সন্ত্রাসী মুসা-রকি বাহিনীর সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বন্ধসহ তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন


দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ আজ ৮ মে শনিবার দুপুর ১২টায় দিনাজপুর কালিতলাস্থ প্রেস ক্লাবের সামনে দিনাজপুর সদর উপজেলার ১নং চেহেলগাজী ইউনিয়নের রানীগঞ্জ শেখহাটি ও উত্তর ভবানীপুর এলাকার বাসিন্দারা সন্ত্রাসী মুসা-রকি বাহিনীর সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বন্ধসহ তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে মানববন্ধন করে। উক্ত মানববন্ধনে অংশগ্রহণরত ভূক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে নুপুর জাহান জেরীনসহ মর্জিনা, সখিনা, জান্নাতুন, পারভীন, মমতা, আনোয়ারা, রিফাত, ইউনুসসহ  অসংখ্য ব্যক্তি মুসা-রকি বাহিনীর সন্ত্রাসী কর্মকান্ড তুলে ধরে এবং আপেক্ষ করে বলেন, মুসা-রকি বাহিনীর  সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে আমরা অতিষ্ঠ, সর্বদা আমাদেরকে আতংকের মধ্যে জীবনযাপন করতে হয়। কতদিন  আমরা আর মুখ বুঝে তাদের অত্যাচার সহ্য করব। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা মোকদ্দমা থাকলেও সেগুলো তোয়াক্কা না করেই নির্ভয়ে করে যাচ্ছে তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড।
এ সময় তারা অভিযোগ করে বলেন যে, সন্ত্রাসী মুসা-রকি বাহিনীর সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে দিনাজপুর সদর উপজেলার ১নং চেহেলগাজী ইউনিয়নের রানীগঞ্জ শেখহাটি এলাকার খেটে খাওয়া সাধারণ নিরীহ মানুষ। নির্বাক চিত্তে মুখ বুঝে সহ্য করতে হবে তাদের অত্যাচার। আর সামান্য কেউ প্রতিবাদ করতে গেলে পড়তে হবে তাদের রোষানলে। ঝড়াতে হবে শরীরের তাজা রক্ত। তাই এলাকাবাসী আর্তনাদ করে বলেছেন আর কত স্বামী, সন্তানের শরীরের রক্ত ঝড়লে পিপাসা মিটবে মুসা-রকি বাহিনীর। মুসা-রকি বাহিনী সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে এতটাই সক্রিয় যে কোন অপরাধ করতে এবং মানুষের শরীর থেকে রক্ত ঝড়াতে বিন্দুমাত্র কাপর্ণ্য করে না। তাদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের একাধিক মামলা থাকলেও তারা নির্ভয়ে করে যাচ্ছে একের পর এক অপরাধ। মামলা হলেও আইনের ফাঁক ফোকর দিয়ে বেরিয়ে এসে আবার শুরু করে অপরাধ কর্মকান্ড। গত ২৬জানুয়ারী সন্ধ্যা ৭টায় মুসা সহকারে  কোতয়ালী থানায় দায়েরকৃত মামলা ৭৪ নং এজাহারে উল্লেখিত আসামীদ্বয় রানীগঞ্জ মোড়ে সবুজ নামের এক ব্যক্তিকে আটকিয়ে ছিনতাই করাকালে অত্র এলাকার নাহিদ রানা সহ এলাকাবাসী এগিয়ে এসে ছেলেটিকে রক্ষা করায় ক্ষিপ্ত হয় মুসা-রকি বাহিনী। ঐ দিন রাত ৮টা ৩০মিনিটে মুসা তার সংগীয় সন্ত্রাসী বাহিনী শেখহাটি গ্রামের রোহান, মোঃ হেলাল, মোঃ রাজু, মোঃ পাভেল ও মোঃ রাশেদ সহ আরো কয়েকজনকে নিয়ে রানীগঞ্জ মোড়ে নাহিদ রানাকে পেয়ে কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করে। এরই প্রেক্ষিতে মোঃ নাহিদ রানার স্ত্রী নুপুর জাহান জেরীন বাদী হয়ে দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং ৭৪/৭৪। উক্ত মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আসামীরা জামিন নেওয়ার পর আরো বেপোরয়া হয়ে উঠে। যখন তখন নাহিদ রানার পরিবার বর্গকে ভয় দেখিয়ে নাহিদকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে মামলা তুলে নেওয়ার জোর তৎপরতা চালাচ্ছে। বর্তমানে মোঃ নাহিদ রানার স্ত্রী নুপুর জাহান জেরীন সহ তার পরিবার বর্গ নাহিদ রানার জীবন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে মর্মে তার নিরাপত্তার সার্থে ২৫এপ্রিল দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন যার জিডি নাম্বার ১২৪৮। অনুরুপভাবে গত ১লা মে রাত আনুমানিক ৯টা ৩০মিনিটে রানীগঞ্জ মোড়ে মামুন কবীর নামে চা দোকানদারকে একই সুত্রে গাথা সন্ত্রাসী বাহিনী রকি, রাজু, আকাশ, রাকিব সহ কতিপয় সন্ত্রাসী দলবদ্ধ হয়ে এসে তাকেও গুরুতর রক্তাক্ত জখন করে। এভাবে আর কতদিন এইসব গুন্ডাবাহিনীর কাছে মাথা নত করে চলতে হবে এবং নীরবে সহ্য করতে হবে তাদের অত্যাচার। তাই অনেকে দুঃখে আক্ষেপ করে বলেন আমাদের দেশ স্বাধীন হয়েছে ঠিকই কিন্তু আমরা এখনও স্বাধীন হয়নি। আমরা সাধারণ মানুষ এই সব সন্ত্রাসীদের কাছে জিম্মি হয়ে রয়েছি। তাই সাময়িক ঘটে যাওয়া ভুক্তভোগী পরিবার দুটি ছাড়াও উক্ত এলাকার সাধারণ মানুষদেরকে উপরোক্ত  সন্ত্রাসী বাহিনীর পরাধীনতার জিঞ্জির থেকে মুক্ত করে নির্ভয়ে বেঁচে থাকার প্রয়াসে এবং তাদের আতংক থেকে নিস্তার পেতে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর উর্ধবতন কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।



শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা