মাদার জান্নাত ফাউন্ডেশন ও ইডাফ ফাউন্ডেশন এর পৃষ্ঠপোষকতায় শীতবস্ত্র বিতরণ

মাদার জান্নাত ফাউন্ডেশন ও ইডাফ ফাউন্ডেশন এর পৃষ্ঠপোষকতায়  শীতবস্ত্র বিতরণ

লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ
লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলার ভেলাবাড়ি ইউনিয়ন এ মাদার জান্নাত ফাউন্ডেশন ও ইডাফ ফাউন্ডেশন
চেয়ারম্যান জান্নাতুল ফেরদৌস এর উদ্যোগে আদিতমারী উপজেলার শতাধিক শীতার্ত গ্রামবাসী হাতে কম্বল তুলে দিয়েছে সততা সমাজকল্যাণ সংস্থা ।
 শুক্রবার  আদিতমারী উপজেলার ভেলাবাড়ি ইউনিয়ন সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন স্থানঃ ভেলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ মাঠ।

শুক্রবার  সকাল ১০টায় শুরু হয় কম্বল বিতরণ। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন  ইউনিয়ন  গিয়ে শীতার্তদের মাঝে কম্বল তুলে দেন  মাদার জান্নাত ফাউন্ডেশন ও ইডাফ ফাউন্ডেশন এর 
চেয়ারম্যান জান্নাতুল ফেরদৌস
  স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান  মোহাম্মদ আলী  সভাপতিত্ব করেন নজরুল ইসলাম প্রধান উপদেষ্টা, মাদার জান্নাত ফাউন্ডেশন। আরও উপস্থিত ছিলেন মোঃ মনিরুল ইসলাম নির্বাহী পরিচালক মাদার জান্নাত ফাউন্ডেশন, গোলাম সরোয়ার সভাপতি সততা সমাজকল্যাণ সংস্থা ভেলাবাড়ি আদিতমারী, একরামুল হক সহসভাপতি সততা সমাজকল্যাণ সংস্থা আদিতমারী,  এনসানা বেগম সাধারণ সম্পাদক সততা সমাজকল্যাণ সংস্থা আদিতমারী,মোঃ: শাহ্ আলম সরকার, সাধারণ সম্পাদক, একতা সমাজ কল্যাণ সংস্থা এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ইডাফ ফাউন্ডেশন ও মাদর ফাউন্ডেশনের সদস্য বৃন্ধু ও এলাকার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বর্গ ও ও ইলেকট্রিক প্রিন্ট মিডিয়া উপস্থিত ছিলেন।

পটিয়া পৌরসভা ৬ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে রুবেল দাশ বাবু'র মনোনয়ন দাখিল

পটিয়া পৌরসভা  ৬ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে রুবেল দাশ বাবু'র মনোনয়ন দাখিল

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ-  আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে রুবেল দাশ বাবু  শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে মনোনয়ন ফরম  দাখিল করেন উপজেলা নির্বাচনী কর্মকর্তা আরাফাত আল হোসাইনী কাছে। রুবেল দাশ বাবু সকলের সহযোগিতা দোয়া আশীর্বাদ কামনা করে বলেন, হয়রানি মুক্ত আদর্শ মডেল ওয়ার্ড গড়ে তুলতে তাকে  ভোট দিয়ে     

সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন সমাজ গঠন করতে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। মনোনয়ন দাখিলের সময় এলাকার মান্যগন্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

নতুন দিনের কবিতা-কথায় ৮০ তম সাউন্ডবাংলা-পল্টনড্ডা

নতুন দিনের কবিতা-কথায় ৮০ তম সাউন্ডবাংলা-পল্টনড্ডা

নিউজ ডেস্কঃ জাতীয়  সাংস্কৃতিকধারার আয়োজনে নতুন দিনের কবিতা-কথায় ৮০ তম সাউন্ডবাংলা-পল্টনড্ডা অনুষ্ঠিত হয়েছেন। আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন কবি খান কাউসার কবির। সভাপতিত্ব করেন জাতীয় সাংস্কৃতিকধারার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলতাফ হোসেন রায়হান। নতুন বছরের কথা-কবিতা-গানে অংশ নেন বরেণ্য সংবাদযোদ্ধা শিমুল খান, ইঞ্জিনিয়ার আলমগীর, মানবাধিকার কর্মী এম এ লতিফ হাওলাদার ও বিমল সাহা। কথাশিল্পী শান্তা ফারজানার গল্প বেওয়ারিশ পাঠ-এর পর তিনি নতুন বছরে জাতীয় সাংস্কৃতিকধারার সম্মেলন প্রসঙ্গে আলোচনায় অংশ নেন। মোমিন মেহেদী এ আয়োজনে নিবেদিত দেশপ্রেমিক-মানবপ্রেমিক লেখকদেরকে অংশ নেয়ার আমন্ত্রণ জানিয়ে বলেন, সাহিত্য সংস্কৃতি কোন ঘর বা সংস্থার বিষয় নয়; আন্তরিকতার বিষয়। যে যত আন্তরিকতায় অগ্রসর হয়, সে তত সফল ও আলোচিত হয়। ষড়যন্ত্রকারীরা সাহিত্যিক নয়; তারা নদর্মার কীটে পরিণত হয়েছে ইতিহাসে বারবার। ১৫ জানুয়ারি বিকেল ৫ টা থেকে পুরো আয়োজনটি সরাসরি সম্প্রচার করেছে সাউন্ডবাংলা টিভি।

দিনাজপুরে প্রায় ৫ হাজার গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে সরকারি ঘর

দিনাজপুরে প্রায় ৫ হাজার গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে সরকারি ঘর

মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃমুজিববর্ষ উপলক্ষে দিনাজপুরে গৃহহীন পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হবে সরকারি ঘর। ২০ জানুয়ারী প্রধানমন্ত্রী সারা দেশে এই প্রকল্পটি উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। যে কারনে বেশ জোরে সরে চলছে ঘর তৈরীর কাজ। এদিকে নতুন ঘর পেতে যাওয়া সুবিধাভোগিরাও বেশ খুশি। নিজ নিজ ঘর সঠিক ভাবে তৈরী হচ্ছে কিনা সেটিও বুঝে নিচ্ছেন তারা। তবে জেলা প্রশাসক বলছেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রায়ন-২ প্রকল্পের আওতায় নির্মিত গ্রাম গুলোর নাম দেয়া হয়েছে 'জয়বাংলা ভিলেজ'।
মুজিববর্ষ উপলক্ষে দিনাজপুর জেলায় গৃহহীন ৪ হাজার ৭৬৪টি পরিবারকে সরকারি ঘর উপহার দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের আশ্রায়ন-২ প্রকল্পের আওতায় সরকারি খাস জমিতে ভূমি ও গৃহহীন পরিবারের জন্য পাকা ঘর নির্মান করা হয়েছে। আগামী ২০ জানুয়ারী প্রধানমন্ত্রী এই প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। ইতিমধ্যে সকল কাজ সম্পন্ন করা হলেও অল্প কিছু কাজ নির্ধারিত সময়ের আগের শেষ করা হবে বলে জানিয়েছেন সংস্লিষ্টরা। তাই নিজ নিজ ঘরের প্রতিটি কাজ বুঝে নিচ্ছেন সুবিধাভোগিরা। সরকারের পক্ষ থেকে মাথা গোজার ঠাই পেয়ে বেশ খুশি তারা।
এদিকে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা বলছেন, একাধিকবার যাচাই বাছাই শেষে হত দরিদ্র ভূমি ও গৃহহীন পরিবরের মাঝেই এই সব ঘর প্রদান করা হবে। 
জেলা প্রশাসক জানালেন, উক্ত প্রকল্পের আওতায় নির্মিত গ্রাম গুলোর নাম দেয়া হয়েছে 'জয়বাংলা ভিলেজ'। আগামী ২০ তারিখের মধ্যে দিনাজপুরে তিন হাজারের বেশি ঘর হস্তান্তর করা হবে। বাকি গুলো দেয়া হবে পর্যায়ক্রমে।
প্রতিটি ঘর নির্মানে ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লক্ষ ৭৫হাজার টাকা। তবে নিচু জায়গায় মাটি ভরাটের কারনে খরচ কিছুটা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন সংস্লিষ্টরা।

রোবট বানালেন বগুড়া আজিজুল হক কলেজের দুই শিক্ষার্থী

রোবট বানালেন বগুড়া আজিজুল হক কলেজের দুই শিক্ষার্থী

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃবগুড়ায় ৪২ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহে 'পরিবেশের চিকিৎসক' নামে রোবট বানিয়ে প্রথম হয়েছেন দুই শিক্ষার্থী । শিক্ষার্থীরা হলেন- দলনেতা  আবির ইসলাম এবং তার সহকারি নুসরাত জাহান নিতু। তারা দুজনই সরকারি আজিজুল হক কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ।  জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহে বগুড়া জেলায় সিনিয়র গ্রুপে তারা শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছেন। এরপর আবির ও নিতু  বিভাগীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় বগুড়ার প্রতিনিধিত্ব করবে। 

আবির ইসলাম জানান, তাদের প্রকল্পের নাম Doctor of Environment অর্থাৎ পরিবেশের চিকিৎসক।  এই প্রকল্পের মাধ্যমে একটি এলাকার বায়ু দূষণ মাত্রা নির্ণয় করার পাশাপাশি তাপমাত্রা, আদ্রতা  বিবেচনায় কোন পরিবেশে বসবাস করা নিরাপদ হবে তা নির্ণয় করা সম্ভব। পাশাপাশি রোবটটি কোন বিষাক্ত গ্যাস পেলে স্প্রে করার মাধ্যমে সেই গ্যাসকে নিষ্ক্রিয় করতে সক্ষম। এছাড়াও রোবটটিতে একটি হাত(Hand) রয়েছে যা পরিবেশ থেকে ক্ষতিকর বর্জ্য সরাতে সক্ষম।

আবির আরও জানান, তারা  রোবটটির জন্য একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেছে । রোবটটি কোন এলাকায় আছে সেই এলাকার বায়ু দূষণ মাত্রা কেমন এছাড়াও এলাকাটি বসবাসের উপযোগী কিনা সে সকল তথ্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে রোবটটি ওয়েবসাইটে প্রেরণ করতে পারে । এছাড়া  এই রোবটটি জলবায়ু পরিবর্তন রোধে এবং বায়ু দূষণ রোধে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

সরকারি আজিজুল হক কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর শাহজাহান আলী তাদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, 'তারা সারাদেশের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হবে এই কামনা করি।' 


দিনাজপুরের শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করলেন এমপি গোপাল

 দিনাজপুরের শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ  করলেন এমপি গোপাল

মামুনুর রশিদ ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ  নিগমানন্দ সারস্বত সেবাশ্রমের উদ্দ্যোগে অসহ্য়া সহস্রাধীক শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করলেন এমপি মনোরঞ্জনশীল গোপাল।

১৫ জানুয়ারী শুক্রবার বেলা ১২টায় দিনাজপুর কাহারোলের গড়নুরপুরে নিগমানন্দ সারস্বত সেবাশ্রমের স্কুল মাঠে সেবাশ্রমের পরিচালনায় বৃদ্ধাশ্রমের বয়বৃদ্ধ ও এতিম খানার এতিম শিশুসহ স্থানীয় কয়েকটি গ্রামের সহস্রাধীক  অসহায় শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এমপি গোপাল বলেন, অসহ্য়া মানুষদের শীত নিবারনের জন্যে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারী সংস্থা,ব্যাংক ও সমাজের বিত্তশালীরা এগিয়ে এসেছেন। এভাবেই দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের সর্বস্তরের মানুষেরা যদি অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ায় তাহলে শীতকে জয় করা সহজ হয়ে যাবে।   

নিগমানন্দ সারস্বত সেবাশ্রমের সার্বিক পরিচালনায় ও এবি ব্যাংকের অর্থায়নে আয়োজিত শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কাহারোল-বীরগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জনশীল গোপাল। দিনাজপুর কাহারোলের রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামের সহস্রাধীক স্থানীয় মানুষকে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। এসময় নিগমানন্দ সারস্বত সেবাশ্রমের তত্ববধানে পরিচালিত বৃদ্ধাশ্রমের বয়বৃদ্ধ ও এতিম খানার এতিম শিশুদের মাঝে কম্বল দেয়া হয়েছে।

সেবাশ্রমের সেবায়েত নন্দ দুলাল চক্রবর্ত্তীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যানের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন এবি ব্যাংক দিনাজপুর শাখার ম্যানেজার মো: তালেব, ৫নং ইউপি চেয়ারম্যান শরিফুদ্দীন আহম্মেদ, ৬নং ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বাবলু,আওয়ামীলীগ নেতা সুশীল বাবু প্রমুখ।

সাব- রেজিস্ট্রার সফি আকরামুজ্জামানের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

সাব- রেজিস্ট্রার সফি আকরামুজ্জামানের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

কলিন চন্দ্র (ইতু) রায়,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার সাব রেজিস্ট্রার সফি আকরামুজ্জামানের বিরুদ্ধে জমির কাগজপত্র না থাকা সত্ত্বেও জমির দলিল রেজিস্ট্রি করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী তহিদুল ১৩ জানুয়ারি জেলা প্রশাসক (ঠাকুরগাঁও) বরাবর   দীর্ঘদিন যাবৎ ভোগ দখল থাকা সত্ত্বেও জমির মূল মালিক জমি বিক্রয় করতে আসলে অর্থের অভাবে খারিজ করতে না পারা জমি বিক্রয় করতে চাইলে সাব রেজিস্ট্রার তার কাগজপত্র ছাড়া জমি রেজিস্ট্রি করে দিবে না বলে দেয়। ভুক্তভোগী কে নিরুপায় হয়ে বাসায় চলে যেতে হয়।

অপরদিকে অফিস সময় ব্যতীত মো খালেক ও মতিন উভয় পিতা- মৃত মফিজ মেম্বার সাং- সন্ধারই, আব্বাস আলী-পিতা- মৃত হুসেন আলী কে জমির কাগজপত্র না থাকা সত্বেও সরকারের কর ফাঁকি দিয়ে টাকার বিনিময়ে সাব রেজিস্ট্রার জমির দলিল সম্পাদন করে দেয় এমন অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে সাব-রেজিস্ট্রার সফি আকরামুজ্জামানের সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি বলেন, এই দলিল টি দান পত্রে সম্পাদন করা হয়েছে,দানপত্রে অত কাগজ লাগে না।

মোংলায় স্বাধীনতার সু্বর্ন জয়ন্তীতে মুক্তিযোদ্ধা মেয়র চায় নতুন প্রজন্ম

মোংলায় স্বাধীনতার সু্বর্ন জয়ন্তীতে মুক্তিযোদ্ধা মেয়র চায় নতুন প্রজন্ম

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা    
এগারো বছর পর  ১৬ জানুয়ারি শনিবার মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচন হচ্ছে। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরে মোংলা পোর্ট পৌরসভায় মেয়র হিসেবে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে নির্বাচিত হোক সেটি চায় নতুন প্রজন্ম। ৩১ হাজার  ৫শো  ২৮জন ভোটার শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ইভিএমথর মাধ্যমে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। নির্বাচনে ৩জন মেয়র, ৩৫জন কাউন্সিলর এবং ১২জন সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানাগেছে সর্বশেষ মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচন হয়েছিলো ২০১১ সালের ১৩ জানুয়ারি। আন্দোলন-সংগ্রামের এক পর্যায়ে আইনি জটিলতা নিরসনপূর্বক ১১ বছর পর ১৬ জানুয়ারি শনিবার অবশেষে মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচন হচ্ছে। পৌরসভার মোট ভোটার হচ্ছে ৩১ হাজার  ৫শো ২৮জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১৬ হাজার  ৬শো ৮১জন এবং নারী ভোটার ১৪ হাজার  ৮শো ৪৭জন। মোট সাধারণ ওয়ার্ড ০৯, মোট সংরক্ষিত ওয়ার্ড ০৩, মোট ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ১২, মোট ভোট কক্ষের সংখ্যা ৯২জন এবং অস্থায়ী ভোট কক্ষের সংখ্যা ০৫জন। ১২টি কেন্দ্রকে ধরে মোট ৯জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া আইন-শৃংখলা বিষয়ে নজরদারি করার জন্য পর্যাপ্ত পুলিশ, র‍্যাব ও কোস্ট গার্ডের উপস্থিতি থাকবে। নির্বাচনে ৩জন প্রার্থী মেয়র পদে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। প্রতিদ্বন্ধী মেয়র প্রার্থীরা হলেন আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধ শেখ আব্দুর রহমান, বিএনপি মনোনীত ধানেরশীষ প্রতীকের প্রার্থী বর্তমান মেয়র মোঃ জুলফিকার আলী ও বিএনপি নেতা (স্বতন্ত্র) বড়শি প্রতীকের মোঃ মোকছেদুল আলম গামা। এছাড়া কাউন্সিলর পদে ৩৫জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিল পদে ১২জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। নির্বাচন কেমন হবে জানতে চাইলে সর্বদলীয় সম্প্রীতি উদ্যোগ (পিএফজি) এর মোঃ নাজমুল হক জানান আশা করছি নির্বাচন অবাধ-সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য হবে। মোংলা পোর্ট পৌরসভার এবার নির্বাচনে ৫হাজার নতুন ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। পৌর নির্বাচনে কেমন মেয়র চান  জানতে চাইলে নতুন ভোটার ক্রীড়াবিদ শেখ রাসেল বলেন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরে মোংলা পোর্ট পৌরসভায় জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা মেয়র নির্বাচিত হোক আমি তাই চাই।

সারা বিশ্বব্যাপী তুর্কি এ্যাপ বিআইপির দারুণ সাড়া

সারা বিশ্বব্যাপী তুর্কি এ্যাপ  বিআইপির দারুণ সাড়া

কাজী মোঃ সাজ্জাদ হাসানঃ মার্কিন প্রতিষ্ঠান হোয়াটসঅ্যাপ ও ইমো ছেড়ে তুর্কি বার্তা আদান প্রদানের অ্যাপ বিআইপি (BiP) তে যোগদানের হিড়িক চলছে সারা বিশ্বব্যাপী! যার ফলে মুসলিমরা দাবী করছেন এটি তাদের জন্য একটি বড় অর্জন।হোয়াটসঅ্যাপ নিজেদের প্রাইভেসি পলিসিতে বিতর্কিত পরিবর্তন আনার পর থেকেই তুরস্কের পাশাপাশি বিশ্বব্যাপীই নতুন নতুন ব্যবহারকারীর সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে অ্যাপটির। বিশেষত মুসলিম বিশ্বের ব্যবহারকারীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে বিআইপি।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই এ্যাপসটির খবর খুব অল্পতেই ছড়িয়ে পড়ে তার সাথে সাথে ব্যবহারকারীর সংখ্যাও বুলেটের গতিতে বাড়তে শুরু করে, যার কারন- এই এ্যাপটি ব্যবহারকারীর জন্য অধিক নিরাপদ। 

নিরাপদভাবে বার্তা আদান-প্রদানকারী অ্যাপটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান তুরস্কের বৃহত্তম রাষ্ট্রীয় টেলিকম সংস্থা 'তুর্কসেল'। বিআইপি ২০১৩ সালে চালু হয়ে কয়েক বছরের ব্যবধানে ১৯২টি দেশে বিস্ময়কর জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

সংস্থাটির মহাব্যবস্থাপক মুরাত এরকান জানান, গত ৬ জানুয়ারি হোয়াটসঅ্যাপ নিজেদের পলিসিতে পরিবর্তন আনে। এরপর থেকেই গেল কদিনে গড়ে প্রতিদিন প্রায় ২০ লাখ ব্যবহারকারী বিআইপি ইনস্টল করেছেন। খবর ডেইলি সাবাহর।

তুর্কসেলের মহাব্যবস্থাপক আরও জানান, গত শুক্রবার থেকে ৬৪ লাখ ব্যবহারকারী হোয়াটঅ্যাপস ছেড়ে বিআইপিতে যোগদান করেছেন। বর্তমান পরিবেশে বিআইপি নিরাপদ স্থান হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। আমরা টেলিগ্রামের সাথে পাল্লা দিয়ে এগিয়ে চলেছি।

গত রোববার ব্যক্তিগত তথ্য পাচারের আশঙ্কায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানের কার্যালয় মার্কিন অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ বন্ধ করে দেশীয় অ্যাপটি চালু করার ঘোষণা দেয়। এরপর থেকেই তুর্কি লোকজন মার্কিন অ্যাপ হোয়আটস অ্যাপ ছেড়ে বিআইপি ব্যবহার শুরু করেন। এরদোগানের কার্যালয়ের ওই বিবৃতির পর মাত্র ২৪ ঘণ্টায় বিআইপির গ্রাহক সংখ্যা বাড়ে ১১ লাখ ২০ হাজার।একই সাথে মুসলিম বিশ্বের ব্যবহারকারীদের মাঝেও অ্যাপটি ব্যবহারের ধুম লক্ষ করা গেছে। বাংলাদেশে অনেককে অ্যাপটি ইনস্টল করার পাশাপাশি অন্যদেরকেও উৎসাহিত করতে দেখা গেছে।

এরকান জানান, তুরস্কের স্থানীয় অ্যাপটির ডাউনলোডকারীর সংখ্যা ৬ কোটি ছাড়িয়েছে। কয়েক মাসের মধ্যে ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০ কোটি (একশ মিলিয়ন) ছাড়াবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

এদিকে, হোয়াটসঅ্যাপ নিজেদের প্রাইভেসি পলিসিতে বিতর্কিত পরিবর্তন আনার পর বিশ্বের অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাপগুলোর ব্যবহারকারীর সংখ্যাও ব্যাপক হারে বেড়েছে। রাশিয়ায় জন্মগ্রহণকারী টেলিগ্রামের প্রতিষ্ঠাতা পাবেল দ্রুভ মঙ্গলবার জানান, বিগত ৭২ ঘণ্টায় তাদের নতুন ব্যবহারকারী বেড়েছে আড়াই কোটি। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী অ্যাপটির৫০ কোটির অধিক সক্রিয় ব্যবহারকারী রয়েছে।

তুর্কসেলের মহাব্যবস্থাপক বলেন, জার্মানি হচ্ছে বিআইপির অন্যতম বৃহত্তম সক্রিয় বাজার। ফ্রান্স ও ইউক্রেনেও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মানুষ অ্যাপটি ডাউনলোড করেছেন। ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যে অ্যাপটির ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বর্তমানে অ্যাপটির মাসিক সক্রিয় ব্যবহারকারীর সংখ্যা এক কোটি বলে জানান তিনি।

আতঙ্কের জনপদ শৈলকুপা পৌরসভা নির্বাচন কেমন হবে! - একটু ফিরে দেখা

আতঙ্কের জনপদ শৈলকুপা পৌরসভা নির্বাচন কেমন হবে! - একটু ফিরে দেখা

সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ৫ম শৈলকুপা পৌরসভা নির্বাচনের আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা বাকি। আগামীকাল ১৬ জানুয়ারি শনিবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এ আকাঙ্ক্ষিত নির্বাচন। নির্বাচন ঘিরে প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামীলীগ মনোনীত ও আওয়ামীলীগ একাংশের সমর্থিত  স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মি সমর্থকদের মধ্যে কয়েকদফা ধাওয়া-পালটা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে বেশ কয়েকজন আহতও  হয়েছে। ১৩ জানুয়ারি বুধবার রাতে শৈলকুপা পৌরসভার  ৮ নং ওয়ার্ডের   কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত আলীর ছোটোভাই লিয়াকত আলী ছুরিকাঘাতে নিহত হওয়ার পর মধ্যরাতে একই ওয়ার্ডের অপর কাউন্সিলর প্রার্থী আলমগীর খান বাবুর মরদেহ কুমার নদ থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। রহস্যজনক এ মৃত্যুতে ৮ নং ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর নির্বাচন বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন ঘিরে  দুটি অপমৃত্যুর ঘটনায় পৌর এলাকার পরিবেশ থমথমে। আতঙ্ক বিরাজ করছে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে। ভোটারদের আশ্বস্ত করতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর ভূমিকা রাখা প্রয়োজন। ক্ষমতাসীন সরকারের আমলে বিগত দুটি  জাতীয় নির্বাচনসহ  স্থানীয় সকল নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি আশঙ্কাজনক হারে কমে গেছে। নির্বাচন ব্যবস্থার প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থা ও বিশ্বাসে চিড় ধরেছে অনুরূপভাবে। এবারের প্রথম ধাপের পৌরসভা নির্বাচনে কিছুটা ব্যতিক্রম লক্ষ করা গেছে । সরকার ও স্থানীয় প্রশাসনের সদিচ্ছা থাকলে আবার জনগণকে ভোটকেন্দ্রে টেনে আনা সম্ভব। স্থানীয় নির্বাচন দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হওয়ায় সরকারি দল এবং বিরোধীদলের মধ্যে টান টান উত্তেজনা থাকার কথা কিন্তু কার্যকরী বিরোধীদল  না থাকায় নির্বাচনের মাঠে সে উত্তাপ নেই। যেটুকু আছে তা হলো সরকারি দল মনোনীত  প্রার্থী এবং মনোনয়ন বঞ্চিত স্বতন্ত্রপ্রার্থীর মধ্যে। শৈলকুপা পৌরসভায় এবারের নির্বাচনে  মেয়র পদে ৪ জন প্রার্থী  প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। আওয়ামীলীগ মনোনীত বর্তমান মেয়র কাজী আশরাফুল আজম (নৌকা), বিএনপি মনোনীত সাবেক মেয়র খলিলুর রহমান (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈয়বুর রহমান খান (জগ) এবং জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী মোঃ আবু জাফর (লাঙল)। এদের ৪ জনের বাড়িই বলতে গেলে একই গ্রামে। 
  শৈলকুপা  পৌরসভা গঠনের পর বিগত  ৪ টি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে ১৯৯৩ সালে বিএনপি মনোনীত ও সমর্থিত প্রার্থী খলিলুর রহমান  আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী লুলু কাজী এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী আশরাফুল আজমকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১২ বছর পর ২০০৪ সালে ২য় পৌরসভা নির্বাচনে  বিএনপির  মনোনয়ন বঞ্চিত স্বতন্ত্র  প্রার্থী খলিলুর রহমান আবারও মেয়র নির্বাচিত হন  আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী কাজী আশরাফুল আজম এবং বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আমজাদ হোসেনকে পরাজিত করে।
 ২০১১ সালে ৩য় পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন ও সমর্থন পান তৈয়বুর রহমান খান। বিএনপির মনোনয়ন ও সমর্থন পান খলিলুর রহমান এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী ছিলেন কাজী আশরাফুল আজম। প্রতিদ্বন্দ্বীতা পূর্ণ এ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন কাজী আশরাফুল আজম।
 ২০১৬  সালে শৈলকুপা পৌরসভার ৪র্থ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় দলীয় প্রতীকে। নির্বাচনে  আওয়ামীলীগের  মনোনয়ন লাভ করেন  কাজী আশরাফুল আজম, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী খলিলুর রহমান এবং বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন তৈয়বুর রহমান খান। দলীয়চাপে শেষ মুহুর্তে তৈয়বুর রহমান খান প্রার্থীতা প্রত্যাহার করলে অনেকটা বিনা বাধায়, নিরুত্তাপ নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী খলিলুর রহমানকে হারিয়ে মেয়র নির্বাচিত হন কাজী আশরাফুল আজম।
 বিগত দিনের ভোটের হিসাবে কাজী আশরাফুল আজম এবং খলিলুর রহমান দুজনেরই  সামাজিক ও রাজনৈতিক  ভিত্তি অত্যন্ত মজবুত। দীর্ঘদিন আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় থাকায় বিএনপি প্রার্থী খলিলুর রহমানের  অবস্থান ততটা শক্ত না হলেও স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈয়বুর রহমান খান এর সামাজিক অবস্থান বেশ পাকাপোক্ত। সুষ্ঠু ভোট হলে ভোটার যা-ই উপস্থিত হোক প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে ত্রিমুখী। 
  বিগত দিনের তুলনায় এবারের নির্বাচন চিত্র কিছুটা ভিন্ন। এবার ভোট হবে ইভিএম পদ্ধতিতে তারপরে রয়েছে  শক্ত স্বতন্ত্র প্রার্থী যার সমর্থক আওয়ামীলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা। বিগত ৪ টি নির্বাচনের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি এবারের নির্বাচনটাকে 
 ২০০৪ ও ২০১১  সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের সাথে মেলানো যায়। বিএনপি সরকার আমলে অনুষ্ঠিত ২০০৪ সালে ও আওয়ামীলীগ  আমলের ২০১১ সালের শৈলকুপা পৌর নির্বাচন  স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ হয়েছিল। আশা করছি আগামীকালের ৫ম শৈলকুপা পৌরসভা নির্বাচনটিও স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ হবে। দাঙ্গা, ফ্যাসাদ, ভয়ভীতি উপেক্ষা করে ভোটাররা  বিনাবাধায় ভোট প্রদান করবেন। জনতার রায়ে নির্বাচিত হবেন সত্যিকারের জনপ্রতিনিধি।

মোজাম্মেল হক স্যারের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্ব মানবতা কমিশনের রাষ্ট্রদূত দেওয়ান বেদারুল ইসলাম

মোজাম্মেল হক স্যারের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্ব মানবতা কমিশনের রাষ্ট্রদূত দেওয়ান বেদারুল ইসলাম

মোঃ রাশেদুল ইসলাম রাশেদ,সাভার উপজেলা প্রতিনিধি: র‍্যাব ৪ এর পরিচালক মোজাম্মেল হকের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্ব মানবতা কমিশনের বাংলাদেশে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত জনাব মোঃ দেওয়ান বেদারুল ইসলাম।

জন্মদিনের শুভেচ্ছা বার্তায় তিনি জানিয়েছেন --
শুভ জন্মদিন মানবতার সেবক, শ্রদ্ধাভাজন জনাব মোঃ মোজাম্মেল হক বিপিএম, পিপিএম অতিরিক্ত ডিআইজি মহোদয়।
আল্লাহ রাব্বুল আলামিন স্যারকে মানবতার সেবা করার জন্য আরও উচ্চ আসনে অধিষ্ঠিত করুন:- আমীন।

happy birthday
servant of humanity, Respect Mr. Md Mozammel Hoque BPM, PPM Additional DIG.
May allah almighty place in a higher position to serve humanity:- amen

তৌহিদুল আলম'কে বিএনপি'র পুর্নরায় মেয়র প্রার্থীর দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

তৌহিদুল আলম'কে বিএনপি'র পুর্নরায় মেয়র প্রার্থীর  দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

সেলিম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টারঃ- আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী পটিয়া পৌরসভার নির্বাচনে  বিএনপি আন্দোলন সংগ্রামের ত্যাগি মাঠের নেতা বিগত নির্বাচনে পটিয়া পৌরসভার নির্বাচনে  বিএনপি দলীয় মেয়র প্রার্থী তৌহিদুল আলম'কে পুর্নরায়  বিএনপি'র পৌর মেয়র প্রার্থী ঘোষণার দাবিতে ১৫ জানুয়ারি  শুক্রবার সকাল ১১ টায় বিএনপি কার্য়লয়ের সামনে বিএনপি, যুবদল ছাএদলের নেতা কর্মীরা মানববর কর্মসূচি পালন করে।পরে পটিয়া পৌর সদর এক বিশাল  বিক্ষোভ মিছিল পৌরসদরে মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে দলীয় কার্য়লয়ে সামনে  সমাবেশ করে । এতে বক্তব্য রাখেন,পটিয়া পৌরসভা যুবদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আবছার উদ্দিন, সাবেক পটিয়া পৌর ছাএদলের সাধারণ সম্পাদক নুরুল হাকিম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক এনাম, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবদলের দপ্তর সম্পাদক জমির উদ্দীন আজাদ,সাবেক পৌর যুবদলের দপ্তর সম্পাদক নুরুল কবির,সাবেক কৃষি বিষয়ক সম্পাদক নুরুল আলম, পটিয়া পৌর যুবদল নেতা আলমগীর বাবু,মোঃ আলী,নাজিম উদ্দিন, আবদুল মোমেন,দিদারুল ইসলাম, ফোরকান, ইলিয়াছ,ওসমান, মোরশেদ, রণী, পটিয়া পৌর  স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা ওমর ফারুক সুমন,জমির, মোঃ শরীফ,নাজিম উদ্দিন নাজু, বেলাল উদ্দিন, শহিদ, বাবলু, রিপন, মন্নান, ইদ্রিচ,জিয়া,দিল মোহাম্মদ, মোঃ সেলিম, মোঃ হাসান, পৌর ছাএদল নেতা ইমরান হোসেন, রিয়াজুল ইসলাম রাজু,জায়দুল ইসলাম নয়ন,জুয়েল, আজিম,তানজির,রিয়াদ,রায়হান, বাবু, সাকিব, মাহিন, কলেজ ছাএদল নেতা মারুফ,সাকিব, মানিক,সায়েম, ইফতেখার,
পৌর ২ নং ওয়ার্ড ছাএদলের সভাপতি হিসবুুল বাহার প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন বিএনপি'র আন্দোলন সংগ্রামের রাজপথের খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান একনিষ্ঠ সৈনিক বিগত পটিয়া পৌর নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী জননেতা তৌহিদুল আলম তৌহিদ'কে পুর্নরায় মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করার জন্য দলের কেন্দ্রীয় হাইকমান্ডের কাছে জোর দাবি জানান। 

কয়রায় ফ্রি মেডিসিন ব্যাংক উদ্বোধন

 কয়রায়  ফ্রি মেডিসিন ব্যাংক উদ্বোধন


মোহা: ফরহাদ হোসেন কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধিঃঅন্যের দেওয়া টাকা কিংবা ওষুধে চিকিৎসা পাবে দুস্থ রোগীরা'- ঠিক এমনই চিন্তা ধারা থেকে খুলনার কয়রা উপজেলার মধুর মোড়ের নাসিম মেডিকেল হলে যাত্রা করেছে ফ্রি মেডিসিন ব্যাংক।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল ৯ টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস ওষুধ প্রদান করে এই মেডিসিন ব্যাংক উদ্বোধন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কপোতাক্ষ ক্লিনিকের পরিচালক ডাঃ ইমদাদুল ইসলাম, নাসিম মেডিকেল হলের পরিচালক এস এম ইয়াহিয়া,  হিউম্যানিটি ফার্স্টের আঞ্চলিক প্রতিনিধি মাহমুদুল হাসান বাদশাহ, বায়জিদ হোসেন, সাইফুল ইসলাম, আবুহেনা কামাল,রায়হান, হাবিবুর,  এনামুল, আনাম প্রমুখ। 


হিউম্যানিটি ফার্স্টের পরিচালক প্রভাষক ইদ্রিস আলী বলেন, ফার্মেসি থেকে ওষুধ কেনার সময় এখানে আপনি প্রয়োজনীয় কিছু ওষুধ রেখে যেতে পারেন। অথবা আপনার বাসায় পড়ে থাকা অব্যবহৃত ওষুধ এই মেডিসিন ব্যাংকে রাখতে পারেন। অথবা আপনি হয়তো ১০০০ টাকার ওষুধ কিনছেন, অন্তত ১০ টাকা আমাদের ফ্রি মেডিসিন ব্যাংকে দিতে পারেন। আপনার রাখা ওষুধ অথবা টাকা দিয়ে ওষুধ কিনতে পারে না এমন ব্যক্তিদের ওষুধ কিনে দেওয়া হবে।

এসোসিয়েশন এর স্পোর্টস এন্ড ইন্টারটেইনমেন্ট এসএসসি ২০০১ এর উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

এসোসিয়েশন এর স্পোর্টস এন্ড ইন্টারটেইনমেন্ট এসএসসি ২০০১ এর উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

মোঃ রশিদুল ইসলাম রিপন, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: আজ শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি ২০২১)  সকাল ১১ টায় এসোসিয়েশনের স্পোর্টস এন্ড ইন্টারটেনমেন্ট এসএসসি ২০০১ এর উদ্যোগে এসোসিয়েশন এর বন্ধুদের সহযোগিতায় কুলাঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের দুঃস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি  হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মোঃ অ্যাডভোকেট মতিয়ার  রহমান, চেয়ারম্যান জেলা পরিষদ, লালমনিরহাট।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মোঃ শাহজাহান আলী, সাবেক চেয়ারম্যান কুলাঘাট ইউনিয়ন পরিষদ।
আরো উপস্থিত ছিলেন জনাব মোঃ সাইফুল ইসলাম, সভাপতি জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ লালমনিরহাট।
জনাব মোঃ শাহজাহান আলী জুয়েল, প্রধান শিক্ষক  কুলাঘাট উচ্চ বিদ্যালয়। জনাব মোঃ মিজানুর রহমান মন্টু, সভাপতি, কুলাঘাট উচ্চ বিদ্যালয়।

উক্ত কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন উপরিল্লিখিত ফাউন্ডেশনের ফাউন্ডার ও এডমিন ইঞ্জি: কে এম তারিকুল ইসলাম।
মোঃ কাজল রাব্বি রাহাত,আব্দুল্লাহ মোঃ  শুকরানা। 

ফাউন্ডেশন কার্যকরী পরিষদের সদস্য মোঃ আনারুল ইসলাম ও সাংগঠনিক সম্পাদক
 মোঃ ফরিদ হাসান সবুজ সহ এসএসসি 2001 ব্যাচের সকল বন্ধুরা।


উক্ত কর্মসূচিতে ইঞ্জি: কে.এম. তারিকুল ইসলাম বলেন এটা তাদের সামাজিক দায়বদ্ধতা অনুভূতি থেকে করা। তারা  প্রতি বছর এরকম কার্যক্রম চালিয়ে যান। তাদের পাশাপাশি সারা বছর ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন।

এ যেন আরেক আসমানী জীবন রাজাপুরের পল্লীতে রহিমা বেগম

এ যেন আরেক আসমানী জীবন রাজাপুরের পল্লীতে রহিমা বেগম

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার 
ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলার গালুয়া ইউনিয়নের জীবনদাসকাঠি গ্রামে রহিমা বেগমের বাড়িতে যান। "রহিমা ও আব্দুল মান্নাফ দম্পতির দাম্পত্য জীবনে ৩ মেয়ে ও ১ ছেলে। বিষখালী নদীর তীরে বসবাস করায় ছোট বেলা থেকে এ দম্পতির একমাত্র পুত্র সন্তান মাছ ধরে সংসারে বাবার সাথে সাহায্য করতো। সেই ছেলেটি ২০ বছর পূর্বে ২০ বছর বয়সে সংসারের বাড়তি উপার্জনের জন্য সাগরে মাছ ধরতে যায়। সেই যে গেলো আর ফিরে এলো না। বয়সের ভারে আব্দুল মান্নাফ (৮০) ন্যুজ হয়ে পড়েছে। স্বাভাবিক চলাফেরাও করতে না পারায় শুয়ে বসেই দিন পার করেন বৃদ্ধ মান্নাফ। ৩ মেয়েকেই পাত্রস্থ করেছেন। তবে গরীব পরিবারের জামাই তো গরীবই থাকে। জামাইরাও তো টেনেটুনে সংসার চালায়। ছোট মেয়েটা আমার কাছে থাকে, ওর স্বামী বাসের হেল্পার। অন্যের বাড়িতে কাজ করে, রাস্তার পাশে মাটি দেয়ার কাজ করাসহ যখন যে কাজ পায় তাই করে দু'বেলা দু'মুঠো খাবার জোগার করতেই কষ্ট হয়। অসুস্থ স্বামীর চিকিৎসা এবং ওষুধ খরচ মেটানো অনেক কষ্টসাধ্য বিষয়। ঘরের অবস্থাও অনেক খারাপ। বাতাস এলেই ঘরটি নড়তে থাকে, ভয়ে থাকি কখন যেন মাথা গোজার শেষ আশ্রয়টুকু ভেঙে পড়ে যায়। বৃষ্টি হলেই ঘরের মধ্যে পানি পড়ে ভিজে যায় সবকিছুই। শীতের সময় এলে শীতবস্ত্র ও শীত নিবারণের কোন গরম কাপড় না থাকায় চটের বস্তা গায়ে দিয়ে ঘুমাতে হয়। খাবার ব্যবস্থা ও স্বামীর ওষুধের খরচ মিটালে অন্যদিকে টাকা খরচের আর কোন উপায় থাকে না।" এমন কথা গুলোই আবেগাপ্লুত হয়ে জানালেন রহিমা বেগম। রাজাপুর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মুহাম্মদ আলআমিন বাকলাই জানান, বুধবার দাপ্তরিক কাজে গিয়েছিলাম জীবনদাশকাঠি। সেখানে দেখা হলো রহিমা বেগমের সাথে। অচল স্বামীকে নিয়ে এই ঘরে বসবাস করেন। আমরা যারা দালান-কোঠা, ইট-পাথরে  থেকে শীত আটকাচ্ছি একবারও কি ভাবছি এদের শীত কেমনে কাটছে,আসছে বর্ষাকাল কেমনে কাটবে। 
রাজাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) অনুজা মন্ডল জানান, যাদের সুযোগ আছে এইসব বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অবহিত করবার, তাদের উচিত সরাসরি  সেই দপ্তরকে জানানো। কারন, সারাদিনের অফিসিয়ালি ব্যস্ততায় বাড়তি নজর দেওয়ার সুযোগ না ও হতে পারে। সরাসরি জানানোটা অনেক দ্রæততর, সহজ এবং সুবিধাজনক পন্থা বলেই মনে হয়। শুক্রবার সকালে গালুয়া ইউনিয়নের জীবনদাসকাঠী গ্রামের রহিমা বেগমের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে চাল, ডাল, তেল, লবন, চিনি, নুডলস ও অন্যান্যসহ ১ বস্তা খাদ্যপণ্য এবং ২টি কম্বল উপহার দেন রাজাপুর উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মোক্তার হোসেন।
রহিমা বেগম জানান, সকালে রাজাপুরের স্যারে এসে ২টি কম্বল, ১ কেজি চাল, ১প্যাকেট ডাল, ১ প্যাকেট চিনি, ১ প্যাকেট লবণ, ২ প্যাকেট চিড়া ও ২ প্যাকেট নুডল্স দিয়ে গেছেন আর বলেছেন ঘর আসলে একটি ঘর দিবেন। রাজাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোক্তার হোসেন জানান, আমি রহিমা বেগমের অসহায় জীবনযাপনের বিষয়টি জানতে পেরে উপজেলা ত্রাণ তহবিল থেকে যতটুকু সম্ভব তার বাড়িতে গিয়ে তাকে সহায়তা করেছি। রহিমা বেগমের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি নিয়ে এসেছি, যদি ঘরের জন্য আগের তার আবেদন করা থাকে তাহলে যাচাই করে আর না থাকলে নতুন করে আবেদন করিয়ে পরবর্তিতে সরকারী ঘর বরাদ্ধ এলে প্রক্রিয়া অনুযায়ী তাকে একটি ঘর দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

কুলাউড়ায় মরহুম এ কে এম গোলাম মোস্তফা ট্রাস্টের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল

কুলাউড়ায় মরহুম এ কে এম গোলাম মোস্তফা ট্রাস্টের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃ কুলাউড়া উপজেলার ৮ নং রাউৎগাঁও ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডে মরহুম এ কে এম গোলাম মোস্তফা ট্রাস্টের উদ্যোগে শামসুল উলামা আল্লামা ফুলতলী ছাহেব ক্বিবলা ও মরহুম এ কে এম গোলাম মোস্তফা সাহেবের ঈসালে সাওয়াব উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ।

১৫ জানুয়ারী ২০২১ ইংরেজি রোজ শুক্রবার সকাল ১০ঘটিকায় ট্রাস্টের অস্থায়ী কার্যালয়ে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন ভবানীপুর ছি পি দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওঃ আব্দুস সালাম,বিশিষ্ট সমাজসেবক ও সম্ভব্য মেম্বার পদপ্রার্থী মোঃসিরাজুল ইসলাম শায়েখ, বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী ফকরুল ইসলাম,
ভবানীপুর ছি পি দাখিল মাদ্রাসা পরিচালনা কমিঠির দায়ীত্বশীল আতাউর রহমান লোকমান,সৈয়দ শফায়ত আলী, হাফিজ সিতার আলী, মাওঃআহসান হাবীব রাজুল, ট্রাস্টের চেয়ারম্যান এ কে এম মঈনুল ইসলাম মঈন,পরিচালক মোঃ বদরুল ইসলাম , ভবানীপুর ইসলামি আদর্শ সোসাইটির সাধারন সম্পাদক শামসুজ্জামান চৌধুরী সজলু, নিরাপদ চিকিৎসা চাই কুলাউড়া উপজেলা শাখার যুগ্ম-আহব্বায়ক আশরাফ আলী সুবেক, আলহেরা ইসলামী যুব সংঘের সভাপতি মো:রেজাউল ইসলাম শাফি, উত্তর ভবনীপুর বায়তুস সালাম জামে মসজিদের ইমাম মাওঃ ফখরুল ইসলাম, ট্রাস্টের সদস্য মারজান আহমদ,নজরুল ইসলাম রুয়েল এছাড়া উপস্থিত ছিলেন-সৈয়দ হারুন আলী,মায়া মিয়া,দৌলত মিয়া,মছব্বির মিয়া,গিয়স মিয়া,জসীম উদ্দিন জনি,শাহিন আহমদ প্রমুখ।

পটিয়া পৌর নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন জমা দিলেন রেহেনা আকতার

পটিয়া পৌর নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন জমা দিলেন রেহেনা আকতার

পটিয়া (চট্টগ্রাম)প্রতিনিধিঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডে সাধারণ আসনে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন পটিয়ার ঐতিহ্যবাহী পরিবারের সন্তান সাবেক সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর নারী নেত্রী রেহেনা আকতার মুন্নী। পৌরসভার ৩০ বছরের ইতিহাসে এর আগে সাধারণ আসনে কোন নারী প্রার্থী হননি।
মনোনয়ন পত্র জমা দেয়ার আগে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন তিনি। এসময় তিনি তার এলাকার সমস্যা, সম্ভাবনা ও উন্নয়ন পরিকল্পনা তুলে ধরেন।
তিনি বলেন, আল্লাই-ওখাড়াবাসী যোগ্য ও শিক্ষিত নেতৃত্বের অভাবে ঐতিহ্য ও সুনাম হারিয়েছে। এলাকাবাসী তাদের সেই সুনাম ও ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে মরহুম আবদুল হক আল্লাই পরিবার থেকে প্রার্থী হতে আমাকে বারবার অনুরোধ করায় আমি মনোনয়ন ফরম জমা দিতে বাধ্য হয়েছি।তিনি বলেন, আমার পিতা,ভাইয়েরা আওয়ামী লীগের রাজনীতি করলেও আমাকে দলমত নির্বিশেষে সবাই সমর্থন করছে।তিনি কাগজীপাড়া-ওখাড়াবাসীর সবার সমর্থন কামনা করেন।

জি-বাংলার মিরাক্কেলে জবি শিক্ষার্থী রাশেদ

জি-বাংলার মিরাক্কেলে জবি শিক্ষার্থী রাশেদ

জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) নাট্যকলা বিভাগের ২০১৯-২০ সেশনের শিক্ষার্থী আফনান আহমেদ রাশেদ ভারতীয় টিভি চ্যানেল জি বাংলা আয়োজিত দুই বাংলার জনপ্রিয় কমেডি শো আক্কেল চ্যালেঞ্জার্স মিরাক্কেল'র ১০ম আসরের মূল পর্বে জায়গা করে নিয়েছেন। এবারের আসরের অন্যতম সেরা প্রতিযোগি হিসেবেও রয়েছেন সকলের পছন্দের তালিকায়।

জানা যায়, টুকটাক রম্য লেখালেখির সুবাধেই মীরাক্কেলে রাশেদের অডিশন দেওয়া। গত ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ঢাকায় মীরাক্কেল টিম এর অডিশনের মাধ্যমে বাছাই করা হয় বাংলাদেশী প্রতিযোগিদের। মিরাক্কেল শো'র পরিচালক শুভঙ্কর দার সামনে অডিশনে দিয়ে অনেক প্রতিযোগিদের মধ্যে মীরাক্কেল এর মূল পর্বে জায়গা করে নেয় রাশেদ।

 নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার ছেলে রাশেদের ছোটবেলা থেকেই কমেডি নিয়ে নেশা জন্মে যায়। এর আগে দেশ-বিদেশের বেশ কয়েকটা কমেডি শো-এ অংশ নিয়ে সাড়া জাগিয়েছেন রাশেদ। মিরাক্কেল-১০ এর এবারের আসরে হট ফেবারিট রাশেদ সকলের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। রাশেদের এই সাফল্যে উচ্ছ্বসিত বিভাগীয় শিক্ষক-শিক্ষার্থী সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সবাই। 

অনুভূতি প্রকাশ করে রাশেদ বলেন, কয়েক বছর আগে থেকে টুকটাক রম্য লেখালেখি শুরু করি, সেখান থেকে স্বপ্ন জাগে মীরাক্কেল এর মতো বড় মঞ্চে নিজেকে দেখা। প্রথম যখন স্টেজ এর পেছন থেকে মীর দার কন্ঠে নিজের নাম টা শুনতে পাই, সে এক ভয়াবহ  সুন্দর অনূভুতি। দীর্ঘদিনের স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ান হিসেবে মীরাক্কেলে মঞ্চে নিজেকে দেখে সবচেয়ে সফল মনে হচ্ছে। আর আমাকে প্রথম থেকে সব চেয়ে বেশি অনুপ্রেরণা দিয়ে যাচ্ছেন আমার মা।  প্রথম এপিসোড প্রচারের পর দর্শক, বন্ধুবান্ধব, আত্বীয় স্বজন সহ শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছ থেকে প্রচুর ভালোবাসা আর শুভেচ্ছা পাচ্ছি। আশা করি, পুরোটা পথচলা তারা আমার সাথে থাকবেন এবং এভাবেই অনুপ্রেরণা দিয়ে  যাবেন। ভবিষ্যতে একজন প্রতিষ্ঠিত কমেডিয়ান হিসেবে পরিচিত পেতে চান তরুণ এই কমেডিয়ান রাশেদ।

উল্লেখ্য যে, ভারতীয় বাংলার জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল 'জি বাংলার' আয়োজনে মিরাক্কেল শো এর এবারের আসরের উপস্থাপনায় রয়েছেন জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব মীর আফসার আলি। এবার প্রতিযোগিতায় বিচারক হিসেবে আছেন বলিউডসহ ভারতীয় জনপ্রিয় অভিনেত্রী পাউলি দাম। অভিনেতা ও নায়ক সোহম চক্রবর্তী এবং অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ। অনুষ্ঠানের পরিচালক শুভঙ্কর চট্টোপাধ্যায়। এবার এ আসরে বাংলাদেশ থেকে চারজন প্রতিযোগি মনোনীত হয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছেন এই তরুণ কমেডিয়ান রাশেদ।

কুলাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর স্ত্রীকে প্রচারনায় বাধা প্রদানের অভিযোগ

কুলাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে  বিএনপির মেয়র প্রার্থীর স্ত্রীকে প্রচারনায় বাধা প্রদানের অভিযোগ

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়া পৌরসভার আসন্ন ১৬ জানুয়ারির নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদে এর স্ত্রীকে তার স্বামীর নির্বাচনী প্রচারনায় নৌকা প্রতিকের কর্মীরা বাধা প্রদান ও অশালীন  আচরন করেছে বলে  সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়েছে।

বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদ ১৪ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে ওনার বাসায় এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে মাধ্যমে অভিযোগ করেন বৃহস্পতিবার দুপুরে তাঁর স্ত্রী শাফিয়া চৌধুরী বিএনপির কয়েকজন কর্মী সমর্থক নিয়ে ৫নং ওয়ার্ডের রেলকলোনী এলাকায় গনসংযোগে গেলে নৌকার কর্মীরা তাকে প্রচারনায় বাধা দিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে স্থান ত্যাগ করার হুমকি দেয়। পরে তিনি একটি দোকানে গিয়ে প্রাণ রক্ষা করেন। তিনি আরও অভিযোগ করেন নৌকার কর্মীরা তাকে ও তাঁর পরিবারের লোকজনদের বাসার বাইরে নির্বাচনী প্রচারনায় গেলে প্রাণে হত্যার হুমকি দেয়ায় তিনি তাঁর পরিবারসহ চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন। এ ব্যাপারে তিনি রিটানিং অফিসারের কাছে অভিযোগ করেছেন বলে জানান।

সংবাদ সম্মেলনে সাবেক এমপি নওবাব আলী আব্বাস খাঁন বলেন, কুলাউড়ার রাজনৈতিক শিষ্টাচার রয়েছে। আমরা আশাকরি ভোটের শেষ সময়ে এসে প্রশাসন নিরপেক্ষ নির্বাচন করার ব্যাপারে ভূমিকা পালন করবেন। নিরপেক্ষ নির্বাচনে হলে ধানের শীষের প্রার্থী বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সহ সভাপতি এডভোকেট আবেদ রাজা, সহ সভাপতি আলহাজ্ব শওকতুল ইসলাম শকু এবং মেয়র প্রার্থীর স্ত্রী শাফিয়া চৌধুরী।