১৪ ফেব্রুয়ারী পটিয়া পৌর নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীসহ ৫৯জনের মনোনয়ন দাখিল

১৪ ফেব্রুয়ারী পটিয়া  পৌর নির্বাচনে  মেয়র প্রার্থীসহ ৫৯জনের মনোনয়ন দাখিল


সেলিম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টারঃ-আগামী  পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন সর্বমোট মেয়র পদে ৪ জন, সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১০ জন ও সাধারন কাউন্সিলর পদে ৪৫ জন মনোনয়ন দাখিল করেছেন।

১৭ জানুয়ারী রোববার সংশ্নিষ্ট নির্বাচন রিটার্নিং কর্মকর্তা তারিকুজ্জামান ও সহকারি রিটানিং কর্মকর্তা আরাফাত আল হোসাইনী এ তথ্য জানান।আওয়ামীলীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী মো: আইয়ুব বাবুল: এ সময় তার সাথে ছিলেন দক্ষিণ জেলা আ'লীগ সাধারন সম্পাদক মফিজুল রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রদীপ দাশ, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা: তিমির বরণ চৌধুরী, জেলা পরিষদ সদস্য দেবব্রত দাশ দেবু, উপজেলা আ'লীগ সভাপতি আকম সামশুজ্জমান চৌধূরী, সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, পৌরসভা আ'লীগ সভাপতি আলমগীর আলম ও সাধারন সম্পাদক এমএনএ নাছির, মুজিবুল হক চৌধূরী মহব্বত, শাপলা কুড়ির আসরের নেতা আবদুল করিম।জাতীয় পার্টির মনোনীত মেয়র প্রার্থী শামসুল আলম মাস্টার: এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন জাপা নেতা আবদুস সত্তার রনি, রফিক আহমদ চেয়ারম্যান, নরুল ইসলাম, মুজিবুর রহমান, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী নুরুল ইসলাম সওদাগর: এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপি সদস্য মোজাম্মেল হক, রেজাউল করিম নেছার, পৌরসভা বিএনপি সদস্য সচিব গাজী আবু তাহের, শাহজাহান চৌধুরী, কবিয়াল আবু ইউসুফ।ইসলামী ফ্রন্টে'র মনোনীত মেয়র প্রার্থী মুহাম্মদ আলী হোসাইন: এ সময় তার সাথে ছিলেন ইসলামী ফ্রন্টে নেতা কাজী সোলাইমান চৌধুরী, মাওলানা আনোয়ারুল ইসলাম, মাওলানা আলমদার ফরিদ, মাওলানা কাজী আবু বক্কর, মাওলানা নাছিম হায়দার, কাজী ইলিয়াছ।সংরক্ষিত মহিলা আসন-১০ জন। তৎমধ্যে (সংরক্ষিত-১) বুলবুল আকতার, ফাতেমা বেগম ও শিরিন আকতার চৌধুরী।

(সংরক্ষিত-২) ইয়াছমিন আকতার চৌধুরী, শাহনাজ বেগম, জেসমিন আকতার তুলি ও জোৎস্না আরা বেগম।(সংরক্ষিত-৩) ফারহান ইয়াছমিন, ফেরদৌস বেগম ও পারভীন আকতার।সাধারন ১নং ওয়ার্ডে (৮জন)- আব্দুল খালেক, জয়নাল আবেদীন, রেহেনা আকতার মুন্নী, নজরুল ইসলাম, মোহাম্মদ নাছির, আবদুল মালেক, মীর মো: আবদুল রহমান ও ইয়াছিন আকরাম।সাধারন ২নং ওয়ার্ডে (৪জন)- রূপক কুমার সেন, শাহদাদ হোসেন, সঞ্জীব কুমার দাশ ও মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বিপ্লব।

সাধারন ৩নং ওয়ার্ডে (৫ জন)- আবু ছৈয়দ, ওজি গিয়াস উদ্দিন আজাদ, সাংবাদিক গোলাম কাদের, আবেদুজ্জমান আমিরী ও মোহাম্মদ আলমগীর।সাধারন ৪নং ওয়ার্ডে (৫জন)- গোফরান রানা, শেখ বেলাল উদ্দিন, এম এ আবছার, মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম ও মো: ইব্রাহিম।সাধারন ৫নং ওয়ার্ডে (৪জন)- এম খোরশেদ গনি, মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন, ও মজিবুর রহমান।

সাধারন ৬নং ওয়ার্ডে (৬জন)- শফিউল আলম, রুবেল দাশ বাবু, আবুল কাশেম, রূপসী দাশ, মো: আবুল মনসুর ও জাহাঙ্গীর আলম চৌধূরী।

সাধারন ৭নং ওয়ার্ডে (৪জন)- কামাল উদ্দিন বেলাল, মো: হাসান মুরাদ, কামরুল ইসলাম ও মো: নাজিম।সাধারন ৮নং ওয়ার্ডে (৩জন)- আবদুল মন্নান, ছরোয়ার কামাল মোছলেম উদ্দিন রাজীব ও মোস্তাক আহমদ।

সাধারন ৯নং ওয়ার্ডে (৬ জন)- শেখ সাইফুল ইসলাম, খলিলুজ্জমান আমিরী শিবলু, ইলিয়াছ চৌধূরী ভুট্টো, মো: সোহেল, আহমদ নুর চৌধুরী ও মৌলনা আবদুল মাবুদ আলকাদের।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় আগুনে পুড়ে বৃদ্ধার করুন মৃত্যু

ঝিনাইদহের  শৈলকুপায় আগুনে পুড়ে বৃদ্ধার করুন মৃত্যু

সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ত্রিপুরাকান্দি গ্রামে আজ রাত ৮ টার সময় আগুনে পুড়ে মৃত সৈয়দ আলীর স্ত্রী আছিরন (৮৫) নামের এক বৃদ্ধার করুন মৃত্যু হয়েছে। রান্না ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে শৈলকুপা ফায়ার সার্ভিস ধারণা করছে।আগুন লাগার সময় অসুস্থ বৃদ্ধা মহিলা বারান্দায় ঘুমিয়েছিল। সে হাটা চলা করতে পারতো না৷ পরিবারে অন্য সদস্যরা প্রাণ বাঁচাতে দৌড়ে ঘর থেকে বের হতে পারলে সে অসুস্থ থাকার কারণে হাটা চলা করতে পারতো না তাই বের হতে পারে নি। খবর পেয়ে শৈলকুপা ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট ঘটনা স্থানে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেন ও লাশ উদ্ধার করেন।

সুন্দরবন প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে লিডার্স এর নির্বাহী প‌রিচালক‌কে সংবর্ধনা প্রদান

সুন্দরবন প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে  লিডার্স এর নির্বাহী প‌রিচালক‌কে সংবর্ধনা প্রদান

হুদা মালী শ্যামনগর প্রতিনিধি:  স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড-চ‌্যা‌নেল আই এর'এ্যাগ্রো অ্যাওয়ার্ড' ২০২০ পুরস্কারে ভূষিত হ‌য়ে‌ছে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা লিডার্স।
এই পুরষ্কা‌রে ভূ‌ষিত হওয়ার জন‌্য লিডার্স এর নির্বাহী প‌রিচালক মোহন কুমার মণ্ডল‌ কে লিডাসের নিজস্ব কাযলয়ে ১৭ জানুয়া‌রি ২০২১ সংবর্ধনা প্রদান ক‌রে‌ন সুন্দরবন প্রেস ক্লাব । সংবর্ধনা অনুষ্ঠা‌নে সভাপতিত্বে করেন সুন্দরবন প্রেস ক্লাবের সভাপতি আয়ূব আলী, প্রধান অতিথি উপ‌স্থিত ছি‌লেন সুন্দরবন প্রেস ক্লাবের উপদেষ্টা এস এম জাহাঙ্গীর আলম, সুন্দরবন প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বিলাল হোসেন,সাংগঠনিক সম্পাদক মাছুম বিল্লাহ, প্রচার সম্পাদক নজরুল ইসলাম,কাযনিবাহি সদস্য আব্দুল্লাহ আল মামুন,সাংবাদিক মনিরুজ্জামান (জুলেট), ত্রিদীপ সরদার,সহ ও লিডার্স প‌রিবা‌রের সকল কর্মীবৃন্দ।

বড়লেখায় "ক" শ্রেণীর গৃহহীন ৫০ টি পরিবারের মাঝে দুই শতক করে জমি রেজিস্ট্রি সম্পন্ন হয়

বড়লেখায় "ক" শ্রেণীর গৃহহীন ৫০ টি পরিবারের মাঝে দুই শতক করে জমি রেজিস্ট্রি সম্পন্ন হয়

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে "ক" শ্রেণীর গৃহহীনদের( ভূমিহীন ও গৃহহীন) পুনর্বাসনের লক্ষ্যে ৫০ টি পরিবারের মাঝে দুই শতক করে জমির কবুলিয়ত রেজিস্ট্রি সম্পন্ন হয় আজ।
উপজেলা ভূমি অফিস ও সাব রেজিস্ট্রার অফিস, বড়লেখার সহায়তায় এ কাজ সম্পন্ন করা হয়।এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ, বড়লেখার চেয়ারম্যান জনাব সোয়েব আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বড়লেখা মোঃ শামীম আল ইমরান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নুসরাত লায়লা নীরা,সাব রেজিস্ট্রার, বড়লেখা মোঃ রফিকুল ইসলাম,  উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ উবায়েদ উল্লাহ খান, এপিপি এড. গোপাল দত্ত, দক্ষিণ ভাগ দক্ষিণ ইউপির চেয়ারম্যান মোঃ আজির উদ্দিন, উত্তর শাহবাজপুর ইউপির চেয়ারম্যান আহমদ জুবায়ের লিটন, সদর ইউপির চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজ উদ্দিন, দক্ষিণ ভাগ উত্তর ইউপির চেয়ারম্যান মোঃ এনাম উদ্দিন প্রমুখ। উল্লেখ আগামী ২৩ তারিখ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক উপকারভোগীদের গৃহ ও জমির কাগজ হস্তান্তর করা হবে।

বড়লেখার সুজানগর আইডিয়াল মাদ্রাসায় ১৪ জন কুরআনে হাফেজ কে পাগড়ী প্রদান

বড়লেখার সুজানগর আইডিয়াল মাদ্রাসায় ১৪ জন কুরআনে হাফেজ কে পাগড়ী প্রদান

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার সুজানগর আইডিয়াল মাদ্রাসায় ১৭/০১/২০২১ইং: মাদরাসার হলরুমে মাদ্রাসার চেয়ারম্যান মাওঃ আমিনুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং প্রিন্সিপাল মাওঃ লোকমান হোসাইন ও সহঃ শিক্ষক মাওঃ হুসাইন আহমদের যৌথ সঞ্চালনায় পাগড়ী প্রদান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে হিফজ বিভাগের ১৪ জন ছাত্রের মাথায় পাগড়ী পরিয়ে দেন।প্রধান অতিথি আল্লামা আবু তায়্যিব সৎপুরী সাহেব ও প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন মাওলানা আবু তায়্যিব সৎপুরী।

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন তানযীমুল উম্মাহ মাদরাসা আল আরকাম শাখা ঢাকা এর প্রধান শিক্ষক মাওঃ হাফেজ ক্বারী মাহমুদুল হাসান আযমী, গাংকুল ফাযিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ এফ.এইচ.এম ইউসূফ আলী,সুজানগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব নছিব আলী, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জনাব এমাদুল ইসলাম, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জনাব ফয়সল আহমদ,মাদ্রাসার ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুর রহমান সমছ,সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ছাবির আহমদ,স্যোশাল ইসলামী ব্যাংকের ব্যবস্থাপক জনাব নিজামুল হক, সাবেক প্রিন্সিপাল মাওঃ মুজাহিদুল ইসলাম।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন হিফজ বিভাগের উস্তাদ হাফিজ কামরুল ইসলাম, হাফিজ হাসান জামিল, হাফিজ লুৎফুর রহমান, সহকারী শিক্ষক হাফিজ সাইফুল আলম প্রমূখ।

'মুনাজাতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়'।

রাণীশংকৈল পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন রকি

রাণীশংকৈল  পৌর নির্বাচনে  কাউন্সিলর  পদপ্রার্থী  হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন রকি

কলিন চন্দ্র ( ইতু) রায়,ঠাকুরগাঁও   প্রতিনিধি :আজ ১৭জানুয়ারি রবিবার রাণীশংকৈল পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী মোঃ শহিদুল ইসলাম রকি মনোনয়নপত্র জমা দেন। আসছে ১৪ ফেব্রুয়ারী রবিবার আসন্ন রানীশংকৈল পৌরসভা নির্বাচন ২০২১ উপলক্ষে ৪ নং ওয়ার্ডের  কাউন্সিলর প্রার্থীতার জন্য উপজেলা নির্বাচন অফিসার আঁখি সরকারের হাতে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন শহীদুল ইসলাম রকি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন  ৪ নং ওয়ার্ডের এলাকাবাসী। শহীদুল ইসলাম রকি বলেন,
রাণীশংকৈল পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ড কে সময় উপযোগী উন্নয়নের মাধ্যমে একটি আদর্শ ওয়ার্ড হিসেবে রূপান্তরিত করা  ও এলাকার সকল মানুষের নৈতিক, মানবিক, সামাজিক ও সাংবিধানিক অধিকারের পক্ষে আলোচনার মাধ্যমে তা সুনিশ্চিত করা সেই সাথে পৌরশহরের উন্নয়নের মূল মন্ত্র দারিদ্র দূরীকরণ ও বেকারত্ব দূরীকরণের জন্য কাজ করা।  এই কথা বলে তিনি সকলের কাছে দোয়া ও আশির্বাদ প্রার্থনা করেছেন।

উল্লেখ্য যে,আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী চতুর্থ ধাপে রানীশংকৈল পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

মোংলাপোর্ট পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়রকে অভিনন্দন জানিয়ে বিভিন্ন মহলের বিবৃতি

মোংলাপোর্ট পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়রকে অভিনন্দন জানিয়ে বিভিন্ন মহলের বিবৃতি

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ  মোংলাপোর্ট পৌরসভার নব নির্বাচিত মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমানকে বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দ অভিনন্দন জানিয়ে বিবৃতি প্রদান করেছেন। বিবৃতিদাতারা হলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি, বাগেরহাট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ কামরুজ্জামান টুকু, বাগেরহাট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হেমায়েত উদ্দিন ভূঁইয়া, বাগেরহাট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক সরদার নাসির উদ্দিন, মোংলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ গোলাম সরোয়ার, সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজনথর সভাপতি ফ্রান্সিস সুদান হালদার, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও মোংলা প্রেসক্লাব সভাপতি এইচ এম দুলাল, সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজনথর সাধারণ সম্পাদক এবং উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ, মোংলা প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাসান গাজী, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) এর নেতা নাজমুল হক ও মোল্লা আল মামুন, সর্বদলীয় সম্প্রীতি উদ্যোগ মোংলার নেতা মোঃ ইস্রাফিল হোসেন, শফিকুল ইসলাম সোহাগ, শেখ শাকির হোসেন, মোঃ জাহিদ হোসেন, আব্দুর রশিদ হাওলাদার প্রমূখ। বিবৃতি নেতৃবৃন্দ নব নির্বাচিত পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমানকে অভিন্দন জানিয়ে আশা প্রকাশ করে বলেন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর বছরে রণাঙ্গণের সৈনিক নব নির্বাচিত পৌর মেয়র শেখ আব্দুর রহমানের নেতৃত্বে মোংলা পোর্ট পৌরসভা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় শান্তি-সম্প্রীতি ও সহাবস্থানের মাধ্যমে পরিচালিত হবে।

মোংলা পৌর নির্বাচনে নৌকার বিজয়ে আওয়ামীলীগের আরো দায়িত্ব বেড়ে গেলো

মোংলা পৌর নির্বাচনে নৌকার বিজয়ে আওয়ামীলীগের আরো দায়িত্ব বেড়ে গেলো

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ মোংলা পোর্ট পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমানের বিজয়ে আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীদের দায়িত্ব আরো বেড়ে গেলো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং আওয়ামীলীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি পছন্দ করে না। নির্বাচনের পরে মনে করবেন সবাই ভোট দিয়েছে। কেউ প্রতিহিংসার রাজনীতি করবেন না। রাস্ট্রীয় ক্ষমতায় শেখ হাসিনা। তাঁর ভাবমূর্তি উজ্জ্বল রাখতে হবে। নির্বাচন পরবর্তী পরিবেশ-পরিস্থিতি ভালো রাখতে হবে। ১৭ জানুয়ারি রবিবার দুপুরে দলীয় কার্য্যালয়ে মোংলা উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগের আয়োজনে নৌকা প্রতীকের নব নির্বাচিত মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমানের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি কপোর্রেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক একথা বলেন।

রবিবার দুপুর ১টায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সুনীল কুমার বিশ্বাস। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন বাগেরহাট জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি অধ্যাপক মোল্লা আব্দুর রউফ, উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মিসেস কামরুন্নাহার হাই। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন সংবর্ধিত অতিথি নৌকা প্রতীকের নব নির্বাচিত পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাবেক পৌর মেয়র সেখ আব্দুস সালাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ শেখ কামরুজ্জামান জসিম, আওয়ামীলীগ নেতা মাহমুদ হাসান ছোটমনি, তালুকদার আক্তার ফারুক, কাজী গোলাম হোসেন বাবলু, উৎপল মন্ডল, সাখাওয়াত হোসেন মিলন, ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম, শেখ কবির হোসেন, মোঃ ইস্রাফিল হোসেন হাওলাদার, গাজী আকবর হোসেন, নারজিনা বেগম নাজিন, মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী দরিয়া তালুকদার প্রমূখ। প্রধান অতিথি খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক আরো বলেন পরিক্ষীত লোক আদর্শচ্যুত হবে না। যারা নৌকাকে মা হিসেবে দ্যাখেনা তাদের দরকার নেই। যারা নির্বাচিত হয়েছেন তাদেরকে ৫ বছর পর জনগনের কাছে জবাবদিহি করতে হবে। তাই ১বছরের মধ্যে মানুষের দৃষ্টিভংগি পরিবর্তন করে উন্নয়নের চাবিকাঠিতে পরিণত হতে হবে। সংবর্ধিত অতিথি নবনির্বাচিত পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান বলেন পৌরবাসীর কাছে ভোট ভিক্ষা করে জয়লাভ করেছি। মানুষের আশা পূরণ করে যেন নৌকার সম্মান রাখতে পারি সেই জন্য সকলের সহযোগিতা চাই। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নব নির্বাচিত সকল কাউন্সিলরবৃন্দ উপস্থিত ছিলে।

ধর্ষণরোধে বিচারের সংস্কৃতি চাই : মোমিন মেহেদী

ধর্ষণরোধে বিচারের সংস্কৃতি চাই : মোমিন মেহেদী

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ  নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী বলেছেন, ধর্ষণরোধে বিচারের সংস্কৃতি চাই। আমাদের দেশে কেবল আইন আছে কিন্তু তার যথাযথ প্রয়োগ না থাকায় অপরাধ-দুর্নীতি বৃদ্ধির পাশাপাশি নির্যাতন-ধর্ষণ বেড়েই চলছে।

১৭ জানুয়ারি বিকেল ৫ টায় তোপখানা রোডস্থ ধারার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত 'ধর্ষণরোধে বিচারের সংস্কৃতি' শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।  সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন প্রেসিডিয়াম মেম্বার ও বাংলাদেশ কৃষক ফেডারেশনের সভাপতি কৃষকবন্ধু আবদুল মান্নান আজাদ। বক্তব্য রাখেন সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, প্রেসিডিয়াম মেম্বার আলতাফ হোসেন রায়হান, অধ্যাপক শুভঙ্কর দেবনাথ, মো. আবুল হোসেন, হাসান চৌধুরী, লায়ন সাবিত্রী দাস, মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রী, সাজিয়া আহমেদ প্রমুখ।  

এসময় মোমিন মেহেদী আরো বলেন, নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধিরা অন্যায়ের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ; ধর্ষণ-নির্যাতনের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ; কিন্তু পুলিশ-প্রশাসন নির্যাতক-ধর্ষকের দালাল হিসেবে কাজ করায় অন্যায়-অপরাধ ক্রমশ বেড়ে যায়।

রাজাপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন, প্রতারনা, চেক প্রতারনা মামলার ৩ আসামি গ্রেপ্তার

রাজাপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন, প্রতারনা, চেক প্রতারনা মামলার ৩ আসামি গ্রেপ্তার

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার ঝালকাঠির রাজাপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন, প্রতারনা, চেক প্রতারনা আইনে পৃথক পৃথক মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত তিন পলাতক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার দিবাগত রাতে তাদের নিজ নিজ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো উপজেলার চরপালট এলাকার সৈয়দ আলী খলিফার ছেলে মো. ইলিয়াচ খলিফা, বাগড়ি এলাকার মো. হাতেম আলীর ছেলে মো. খলিলুর রহমান, পুটিয়াখালী এলাকার মো, কাশেম আলী হাওলাদারের ছেলে মো. শহিদুল ইসলাম। রাজাপুর থানা পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন. গ্রেপ্তারকৃতদের রবিবার সকালে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

রাজাপুরে গরু চোর সন্দেহে ৩ যুবক আটক

রাজাপুরে গরু চোর সন্দেহে ৩ যুবক আটক

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার ঝালকাঠি রাজাপুরে সদর ইউনিয়নের বড়কৈবর্তখালী গ্রামের মিলবাড়ি বাজার থেকে গরু চোর সন্দেহে ৩ ব্যক্তিকে এলাকাবাসী আটক করেছে। শনিবার গভীর রাতে মিলবাড়ি বাজার এলাকার এক বাড়িতে গরু চুরির প্রস্তুতিকালে তাদের ধাওয়া দিয়ে এলাকাবাসী আটক করে রাতেই পুলিশে সোর্পদ করে বলে স্থানীয়রা দাবি করে জানান। পুলিশের দেয়া তথ্য মতে আটককৃতরা হলো- নলছিটি থানার কান্দিপুর গ্রামের মৃত ফেরদাউস সরদারের ছেলে তুষার সরদার (২০), বাখেরগঞ্জ থানার ছড়ারি গ্রামের জাকির হাওলাদারের ছেলে বাদশা হাওরাদার (২৫), মুলাদি থানার নন্দির বাজার গ্রামের মনির সরদারের ছেলে সম্রাট সরদার (১৯)। রাজাপুর থানার ওসির তদন্ত আবুল কালাম আজাদ জানান, গরু চুরির প্রস্তুতিকালে গরু চোর সন্দেহে তাদের এলাকাবাসী ধরে পুলিশে সোর্পদ করেছে। তদন্ত করে বিষয়টি দেখা হচ্ছে, আটকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা প্রস্তুতি চলছে। পরে তাদের আদালতে প্রেরন করা হবে।

টাঙ্গাইলের মধুপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে কলেজ ছাত্রীর আত্বহত্যা

টাঙ্গাইলের মধুপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে কলেজ ছাত্রীর আত্বহত্যা

আঃ হামিদ মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের মধুপুর পৌর এলাকার ৭নং ওয়ার্ডের পুন্ডুরা (পুর্বপাড়া) এলাকার মৃত মোনছের আলীর মেয়ে শারমীন সুলতানা মীম নামের এক কলেজ ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্ব হত্যা করেছে বলে জানা যায়।রবিবার(১৭ জানুয়ারী) আনুমানিক  সকাল ১১ টায়  এ ঘটনা ঘটে। জানা জায়, মীম মধুপুর শহীদ স্মৃতী কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বাড়ীর সবাই সকালের খাবার খেয়ে মীমের মা শরিফা বেগম মীমকে বাড়ীতে রেখে তার ছোট ছেলে তাওহীদের জন্য খাবার  নিয়ে পার্শবর্তী একটি নুরানী মাদ্রাসায় যায়। মাদ্রাসা থেকে এসে দেখে মীম তার রুমের খাটের উপড় সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে  আছে। তাকে তাড়া তাড়ি তার মা এবং নানী খাটের উপরের সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলন্ত অবস্হায় ওড়না
কেটে নামালে ততক্ষণে সে মারা যায় বলে প্রত্যক্ষ দর্শীরা জানান। তার মৃত্যুর কারন জনা যায় নি।

ইউজিসি প্রতিবেদনে গবেষণা শূণ্য জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

ইউজিসি প্রতিবেদনে গবেষণা শূণ্য জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

জবি প্রতিনিধি:
সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে ইউজিসির বার্ষিক প্রতিবেদন ২০১৯। প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০১৯ সালে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) গবেষণা সংখ্যা শূণ্য। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মিলছে ভিন্ন তথ্য। বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসেবে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে মোট গবেষণা প্রকল্প সংখ্যা ১৪৩ । গত ৬ জানুয়ারি প্রকাশিত ইউজিসি ৪৬তম বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য দেওয়া হয়।

জবি ছাড়াও আরও ১৯টি বিশ্ববিদ্যালয়কে গবেষণা শূণ্য দেখানো হয়েছে। তবে ইউজিসির এমন আজগুবি তথ্য বিব্রত বোধ করছেন জবির শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। ২০১৯ সালে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে প্রকাশিত বিশেষ জার্নালে দেখা যায়, ২০১৮ - ১৯ শিক্ষাবর্ষে জবির গবেষণা খাতে বরাদ্দ ছিলো ১ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা। একই শিক্ষাবর্ষে মোট বাস্তবায়ন হওয়া প্রকল্প ছিলো ১৪৩ টি। এছাড়াও গবেষণাধর্মী গ্রন্হ প্রকাশ পেয়েছে ১০টি। আন্তর্জাতিক প্রকাশনা আছে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. সুরঞ্জন কুমার দাসের ১টি, একই বিভাগের অধ্যাপক ড. নূরে আলম আবদুল্লাহর ২ টি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. অরুণ কুমার গোস্বামীর ১টি, রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল কালাম মোঃ লুৎফুর রহমানের ২টি, একই বিভাগের ড. মোঃ শাহাজানের ৩টি।

এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, মোট অধ্যাপকের সংখ্যা ৯৬ জন। যার মধ্যে পিএইসডি শেষ করেছেন ৯৪ জন। বাকি ২জন পিএইসডি অধ্যায়নরত। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে এমফিল ও পিএইচডি শিক্ষার্থী সংখ্যা যথাক্রমে, ৩৫ ও ২৮। গবেষণা দপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ড. নূর আলম আবদুল্লাহ বলেন, আমাদের ১৪৩টা গবেষণা বাস্তবায়িত হয়েছে ২০১৯ সালে। অধ্যাপকদের মধ্যে ২ জন ছাড়া সবার পিএইচডি শেষ। তবে তথ্যের গড়মিলের বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারবো না, ঐসময় আমি গবেষণা দপ্তরের দায়িত্বে ছিলাম না।

এবিষয়ে ইউজিসির সদস্য ও প্রতিবেদন সম্পাদনা পরিষদের অধ্যাপক ড. মোঃ সাজ্জাদ হোসেন বলছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অসহযোগীতায় এর জন্য দায়ী। তিনি বলেন, জগন্নাথের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ে অবশ্যই গবেষণা থাকবে। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে চিঠি দিয়ে তথ্য আহ্বান করি। অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ের বারবার যোগাযোগ করা হলেও সাড়া মেলে না। আমাদের চেষ্টা থাকে জুন-জুলাইয়ের মধ্যে প্রতিবেদন প্রকাশ করা। কিন্তু এ ধরণের সীমাবদ্ধতার কারণে সম্ভব হয় না। আগামীতে অনলাইনে অটোমেশনের চিন্তাভাবনা আছে আমাদের, যাতে এধরণের তথ্য বিভ্রাট মুক্ত থাকা যায়।

অসহযোগিতার বিষয়ে জানতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তাদের লেখা উচিত ছিলো তথ্য পাওয়া যায়নি। আমাদের গবেষণা চালু ছিলো না আগে, এমফিল-পিএইসডি প্রোগ্রাম চালুর পর থেকে আমাদের গবেষণা শুরু হয়। ইউজিসি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থায়নে শিক্ষকদের গবেষণা প্রকল্প দেওয়া হয়েছে, অনেক পাবলিকেশন হয়েছে। তবে ১৯ সালের পরে আমাদের গবেষণা, প্রকাশনা আরও বেড়েছে। যেটা হয়েছে ইউজিসির সাথে তথ্য গ্যাপ হয়েছে।

কিশোরগঞ্জে মুজিব বর্ষের রঙিন বাড়ি পাচ্ছে গৃহহীনরা

কিশোরগঞ্জে মুজিব বর্ষের রঙিন বাড়ি পাচ্ছে গৃহহীনরা

মোঃ লাতিফুল আজম,নীলফামারী প্রতিনিধি:নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে রঙিন পাকা বাড়ি পাচ্ছে গৃহহীনরা। ১শ'৪০টি পরিবারের জন্য ভুমি বন্দোবস্তসহ বাড়ি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বরাদ্দ প্রাপ্তরা তাদের স্বপ্নের বাড়িতে বসবাসের জন্য মুখিয়ে আছেন। এসব রঙিন ঘরে ঢুকতে গৃহহীনদের আর তর সইছেনা। 
সরেজমিনে জানা যায়, উপজেলার নিতাই, বাহাগিলী ও চাঁদখানা ইউনিয়নের গৃহহীনদের জন্য তৈরী করা হয়েছে এসব দৃষ্টিনন্দন বাড়ি। বরাদ্দ প্রাপ্তরা কেউ থাকেন পলিথিন মোড়ানো ঝুপড়িতে, কেউ অন্যের বাড়িতে বা কোন প্রতিষ্ঠানের বারান্দায়। এসব রঙিন বাড়ি বরাদ্দ পাওয়া কয়েকজন গৃহহীন জানান তাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নের রুপকথা। বাহাগিলি ইউনিয়নের দাসপাড়া গ্রামের স্বামী পরিত্যক্তা তপিজোন বেগম, নিতাই ইউনিয়নের কাছারীপাড়া গ্রামের শারীরিক ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ভিক্ষুক চিনু বালা ও চাঁদখানা ইউনিয়নের বগুলাগাড়ী গ্রামের বিধবা জেন্নাতোন বলেন, হামরা পাকা বাড়িত থাকমো কোনদিন কল্পনাও করি নাই। জরাজীর্ণ কুঁড়ে ঘরের ওপর পলিথিন দিয়ে থাকি। ঠিকমত ভাত-কাপড় জোগাড় করতে পাই না। বর্ষাকালে সীমাহীন দুর্ভোগে কোন রকমে রাত কাটাই। পাকা বাড়িত থাকাতো দূরের কথা ভিতরেও ঢুকি নাই। এখন হামরা নিজের পাকা বাড়িত থাকমো। যায় হামার থাকার কষ্ট দূর করে দেয়ছে। আল্লাহ যেন তার মঙ্গল করেন। বরাদ্দকৃত বাড়িতে পদার্পণের বার্তায় গৃহহীনরা এখন আনন্দে ভাসছেন। নিতাই ৪০টি, বাহাগিলী ৬০টি ও চাঁদখানা ইউনিয়নে ৪০টি বাড়ি গৃহহীনদের জন্য নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী নির্মাণকৃত এসব বাড়ি পরিদর্শনে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোকসানা বেগম জানান, প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ হতে গৃহহীন ১৪০টি পরিবারকে ২শতক খাস জমি বন্দোবস্তসহ বাড়ি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে ভিক্ষুক, প্রতিবন্ধী, বিধবা, স্বামী পরিত্যক্ত ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার বরাদ্দ পেয়েছেন। মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ২৩জানুয়ারী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গৃহহীনদেরকে এসব বাড়ি উপহার দিবেন।

হয়রানির শেষ নেই তেঁতুলিয়া রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের

হয়রানির শেষ নেই তেঁতুলিয়া রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের

তেঁতুলিয়া প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড়ের তেতুলিয়া রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের কর্মকর্তাদের খারপ আচরনে ক্ষিপ্ত গ্রাহকরা। 
দুপুর ২ টায় রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক তেতুলিয়া শাখায়  টাকা তুলতে গিয়ে ব্যাংক এর এক কর্মকর্তা জানান তাদের কাছে টাকা নেই, সোনালী ব্যাংক থেকে টাকা নিয়ে আসবে তারপর চেক হতে টাকা উঠাতে পারবেন। 

রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক এর এক গ্রাহক জানান দুপুরে এসেছি টাকা তুলে কিন্তুু এখন সময় ৩ টা এখন পর্যন্ত টাকা উঠাতে পারেনি, যে যার মতো করে আসছে,মনে হয় তাদের কোনো কাজ নেই,  ব্যাংক  এর সময় তারা গ্রাহকদের সেবা না দিয়ে তারা বাহিরে নিজেদের ব্যক্তিগত কাজে সময় পার করেন তারা।
ব্যাংক কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে তারা এক পর্যায় গ্রহকদের সাথে খারাপ আচরন করে বলে জানিয়েছেন সেই গ্রাহক।
দুপুর ২ টা পর রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক  একজন কর্মকর্তা ছাড়া দেখা মিলে নাই অন্য কোনো কর্মকর্তার। 

ফুঠফোনে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের তেতুলিয়া শাখার ব্যবস্থাপক ২ঃ৩০ মিনিটে জানান আমাদের ব্যাংক টাকা নাই তাই গ্রহকদের টাকা দিতে একটু সময় লাগছে।

নড়াইলের লোহাগড়া দুই সন্তানের জননী কে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ

নড়াইলের লোহাগড়া দুই সন্তানের জননী কে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ




মো: আজিজুর বিশ্বাস,স্টাফ  রিপোর্টার নড়াইলঃ নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার  মুচড়া গ্রামের স্বামী পরিত্যক্ত দুই সন্তানের জননী কে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
 পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,লোহাগড়ার উত্তর মুচড়া গ্রামের মো: বেলায়েত, এর ছেলে মো: সোহাগ,(৩২) ও একই গ্রামের স্বামী পরিত্যক্ত মেয়ে কে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে আসছিল। দীর্ঘদিন ধর্ষণের পরে ওই নারী কে বিয়ে করে নাই সোহাগ। এই ঘটনার পরে ওই নারীবাদী হয়ে লোহাগাড়া থানায় ১৪/১/২০২১ তারিখ : নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনের একটি মামলা দায়ের করেন।

এরপর মামলার লোহাগড়া থানার সাব-ইন্সপেক্টর এস,আই আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে আসামিকে গ্রেপ্তার করেন।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আশিকুর রহমানের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, ভিকটিমের ডিএনএ পরীক্ষা করানো হয়েছে। এবং আসামি সোহাগকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

তেলের ড্রাম বোঝাই ভ্যান উল্টে চালক নিহত হলেন দৌলতখান উপজেলায়

তেলের ড্রাম বোঝাই ভ্যান উল্টে চালক নিহত হলেন দৌলতখান উপজেলায়

মোঃ আওলাদ হোসেন,জেলা প্রতিনিধি ভোলা,(দৌলতখান) ভোলার দৌলতখানে তেলের ড্রাম বোঝাই ভ্যান উল্টে ড্রামের নিচে চাপা পড়ে আবু বক্কর সিদ্দিক নামের এক শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে ডাক্তার লাঞ্ছিতসহ বিক্ষোভ করেছে স্থানীয়রা। দফায় দফায় বৈঠকের পর বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

গত শুক্রবার রাত ৯টায় ভোলা জেলার দৌলতখান উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের বটতলা নামক স্থানে এঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানান, ঐ সময় প্রতিদিনের ন্যায় মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক স্থানীয় তেল ব্যবসায়ী মোঃ হাকিমের তেল বোঝাই দুটি ড্রাম ভ্যানে করে মোঃ মিলনের দোকানে নিয়ে যাচ্ছিলো। এসময় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে উঠার সময় ভ্যান উল্টে তেল বোঝাই ড্রাম ভ্যান চালক সিদ্দিকের শরীরের ওপর পড়ে। এতে সে গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দৌলতখান হাসপাতালে ভর্তি করেন। হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার মোঃ হাসান মাহমুদ তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভোলা নেয়ার পরামর্শ দেন। তবে রাত পৌন ১১টায় এ্যাম্বুলেন্সে করে ভোলায় নেওয়ার সময়ই তার মৃত্যু হয়।

 

এঘটনায় স্থানীয়রা ডাক্তারদের বিরুদ্ধে কর্তব্য অবহেলার অভিযোগ এনে বিক্ষোভ করে। এক পর্যায়ে উত্তেজিত জনতা ডাক্তারদের লাঞ্চিত করে। খবর পেয়ে দৌলতখান থানা পুলিশ এবং পৌর মেয়রসহ আওয়ামী লীগের নেতারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। তবে সবাইকে ম্যানেজ করেই দ্রুত লাশ দাফনের চেষ্টা চালানো হয়। ব্ষিয়টি রাতে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হলে এবং সাংবাদিকদের তৎপরাতায় আইনি প্রক্রিয়া ছাড়া লাশ দাফন প্রক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায়। পরে নিহতের পরিবার জেলা প্রশাসক'র কাছে আবেদন করলে ময়নাতদন্ত ছাড়া লাশ দাফনের অনুমতি নিয়ে লাশ দাফন করে।

এদিকে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, নিহত আবু বক্কর সিদ্দিক স্থানীয় তেল ব্যবসায়ী মোঃ হাকিমের সাথে কাজ করে। সে ব্লাকের তেল ক্রয়করে এভাবেই বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে আসছে। ওই তেল অপর ব্যবসায়ী মিলনের কাছে বিক্রি করে। তবে এঘটনায় ব্যপক তোলপাড় শুরু হলে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার জন্য চেস্টা চালায়।

এ বিষয়ে তেল ব্যবসায়ী মোঃ হাকিম মুঠোফোনে বলেন,আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ষড়যন্ত্র করছে। আমি ব্লাকের তেলের ব্যবসা করি না। নিহত আবু বকর সিদ্দিককে জীবনেও দেখিনি। তাকে আমি চিনিই না।

অপরদিকে ভোলার দৌলতখান থানার ওসি মোঃ বজলার রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, নিহতের পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় জেলা প্রশাসক স্যার ময়নাতদন্ত ছাড়া লাশ দাফনের অনুমতি প্রদান করেন। হাকিম বিভিন্ন স্থান থেকে তেল ক্রয় করে বিক্রি করে। ভ্যানে করে তেল মিলনের দোকানে পাঠাচ্ছিলো। এসময় দুর্ঘটনা ঘটে। তবে ডাক্তার লাঞ্চিতের বিষয় কোন লিখিত অভিযোগ কেউ দেয়নি।

এদিকে দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার মোঃ আনিসুর রহমান বলেন, আমরা পৌর মেয়র ও উপজেলা চেয়ারম্যানসহ সভা করেছি। ডাক্তারের অবহেলা ছিলো কিনা তা খোঁজ নেয়ার জন্য। তবে রাতে নিহতের স্বজন ও স্থানীয়রা কয়েক দফায় বিক্ষোভ করেছে। তারা ডাক্তার হাসান মাহমুদকে ঘিরে রেখে ধাক্কাধাক্কি করেছে।

দৌলতখানে ফারহান-৫ লঞ্চের ধাক্কায় পা হারালেন কোহিনূর

দৌলতখানে ফারহান-৫ লঞ্চের ধাক্কায় পা হারালেন কোহিনূর

মোঃ আওলাদ হোসেন, জেলা প্রতিনিধি ভোলা (দৌলতখান) ভোলা থেকে ঢাকা যাওয়ার জন‌্য লঞ্চঘাটে এসে পা হারালেন কোহিনুর বেগম (৩৮) নামের এক নারী। ফারহান-৫ লঞ্চের চাপায় তার বাম পা দ্বিখণ্ডিত হয়েছে।

আহত ওই নারী ভোলার দৌলতখান উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ফরাজী বাড়ির মো. সালাউদ্দিনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা ওই নারীকে উদ্ধার করে প্রথমে দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ‌্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখান থেকে চিকিৎসকরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন‌্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠান।শনিবার রাত পৌনে ৯টার দিকে দৌলতখান লঞ্চঘাটে এ ঘটনা ঘটে।

দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বজলার রহমান ঘটনার সত‌্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বাড়ি যাওয়া হল না খাদিজা বেগমের

বাড়ি যাওয়া হল না খাদিজা বেগমের

মোঃ লাতিফুল আজম,নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলায়  ট্রলির ধাক্কায় খাদিজা বেগম (৪০)নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ৭টায়  ঘটনাটি ঘটে উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের জুম্মা পাড়ার অদুরে বিএম কলেজের সামনে।  তিনি ওই ইউনিয়নের দক্ষিণ বাহাগিলী হুরকা পাড়া গ্রামের আবুল কাশেমের স্ত্রী। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, খাদিজা বেগম তারাগঞ্জ থেকে ভ্যানযোগে বাড়ি ফেরার পথে বিএম কলেজের সামনে  ইট বোঝাই ট্রলি,ভ্যানটির পিছনে ধাক্কা দিলে তিনি রাস্তায় ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন।  গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ওই রাতে তার মৃত্যু হয়। 
এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল ট্রলির ধাক্কায় মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আমাদের সংগ্রাম চলবেই মো:রাসেল মিয়া

আমাদের সংগ্রাম চলবেই মো:রাসেল মিয়া

হতমানে অপমানে নয়, সুখ সম্মানে
বাঁচবার অধিকার কাড়তে
দাস্যের নির্মোক ছাড়তে
অগণিত মানুষের প্রাণপণ যুদ্ধ
চলবেই চলবেই,
আমাদের সংগ্রাম চলবেই।

প্রতারণা প্রলোভন প্রলেপে
হ'ক না আঁধার নিশ্ছিদ্র
আমরা তো সময়ের সারথী
নিশিদিন কাটাবো বিনিদ্র।দিয়েছি তো শান্তি আরও দেবো স্বস্তি
দিয়েছি তো সম্ভ্রম আরও দেবো অস্থি
প্রয়োজন হ'লে দেবো একনদী রক্ত।
হ'ক না পথের বাধা প্রস্তর শক্ত,
অবিরাম যাত্রার চির সংঘর্ষে
একদিন সে-পাহাড় টলবেই।
চলবেই চলবেই
আমাদের সংগ্রাম চলবেই

মৃত্যুর ভর্ৎসনা আমরা তো অহরহ শুনছি
আঁধার গোরের ক্ষেতে তবু তো' ভোরের বীজ বুনছি।
আমাদের বিক্ষত চিত্তে
জীবনে জীবনে অস্তিত্বে
কালনাগ-ফণা উৎক্ষিপ্ত
বারবার হলাহল মাখছি,
তবু তো ক্লান্তিহীন যত্নে
প্রাণে পিপাসাটুকু স্বপ্নে
প্রতিটি দণ্ডে মেলে রাখছি।
আমাদের কি বা আছে
কি হবে যে অপচয়,
যার সর্বস্বের পণ
কিসে তার পরাজয় ?
বন্ধুর পথে পথে দিনান্ত যাত্রী
ভূতের বাঘের ভয়
সে তো আমাদের নয়।

হতে পারি পথশ্রমে আরও বিধ্বস্ত
ধিকৃত নয় তবু চিত্ত
আমরা তো সুস্থির লক্ষ্যের যাত্রী
চলবার আবেগেই তৃপ্ত।
আমাদের পথরেখা দুস্তর দুর্গম
সাথে তবু অগণিত সঙ্গী
বেদনার কোটি কোটি অংশী
আমাদের চোখে চোখে লেলিহান অগ্নি
সকল বিরোধ-বিধ্বংসী।
এই কালো রাত্রির সুকঠিন অর্গল
কোনোদিন আমরা যে ভাঙবোই
মুক্ত প্রাণের সাড়া জানবোই,
আমাদের শপথের প্রদীপ্ত স্বাক্ষরে
নূতন সূর্যশিখা জ্বলবেই।
চলবেই চলবেই
আমাদের সংগ্রাম চলবেই।

বড়লেখায় পাকশাইল গ্রেট ভিশন এসোসিয়েশন এর ক্যালেন্ডারের মোড়ক উন্মোচন

বড়লেখায় পাকশাইল গ্রেট ভিশন এসোসিয়েশন এর ক্যালেন্ডারের মোড়ক উন্মোচন

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার সুপরিচিত সামাজিক উন্নয়নমূলক সংস্থা পাকশাইল গ্রেট ভিশন এসোসিয়েশন এর  উদ্যোগে ২০২১ সালের ক্যলেন্ডারের মোড়ক উন্মোচন সম্পন্ন হয়েছে।

গ্রেট ভিশন এসোসিয়েশন এর সেক্রেটারি জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে এসোসিয়েশন সহ সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান এর পরিচালনায় এবং সহ অফিস সম্পাদক আবুল কালাম কিবরিয়ার কোরআন তেলাওয়াত এর মাধ্যমে অনুষ্টান শুরু হয়।

অনুষ্টানে বিগত দিনের কার্যক্রম এবং সামনের অগ্রযাত্রার পরিকল্পনা তুলে ধরে  বক্তব্য রাখেন সংস্থার সহ সভাপতি ইমন আহমদ। তাছাড়াও দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন সংস্থার প্রবাসী শুভাকাঙ্ক্ষী নুরুল হাসান,উপদেষ্টা মাওঃমুজিবুর রহমান,উপদেষ্টা ডাঃনোমান উদ্দীন,উপদেষ্টা ফয়ছল আহমদ প্রমুখ ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্থার  উপদেষ্টা জনাব আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ সুমন সংস্থার অগ্রযাত্রায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে  কাজ করার  আহব্বান জানিয়ে নতুন বছরের-ক্যালেন্ডারের-মোড়ক উন্মোচন  করেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন:-

জাহাঙ্গীর আলম (সাধারণ সম্পাদক)
কবির আহমদ (ক্রিড়া সম্পাদক)
আবজল হোসেন (সহ সাংগঠনিক সম্পাদক)
কাউসার আহমদ (ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক)
আলী  হোসেন(সহ ক্রীড়া সম্পাদক)
মাজহারুল হক( সহ অর্থ সম্পাদক)
ফেরদৌস আহমদ রিয়াদ (সহ অফিস সম্পাদক)
এ বি এম আসিফ(সহ পাঠাগার সম্পাদক)
জিয়াদ বিন মাসুদ আরিফ(সহ ছাত্র কল্যাণ সম্পাদক)
জাবির আহমদ(সহ সাহিত্য সম্পাদক)
নাহিদ আহমদ(পাঠাগার সম্পাদক)
মাজেদ আহমদ(সহ প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক)।

কুলাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে বিজয়ী নৌকার প্রার্থী সিপার

কুলাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে বিজয়ী নৌকার প্রার্থী সিপার

কুলাউড়া প্রতিনিধিঃমৌলভীবাজারের কুলাউড়া পৌরসভার নির্বাচন উৎসবমুখর পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছে। দু'একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া ভোট গ্রহণ শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়। 


নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ নৌকা প্রতীক নিয়ে ১৫৩ ভোট বেশি পেয়ে নির্বাচিত হন। তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৪ হাজার ৮৩৮। 
তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী শাজান মিয়া (জগ) পেয়েছেন ৪ হাজার ৬৮৫ ভোট। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান মেয়র শফি আলম ইউনুছ (নারিকেল গাছ) পেয়েছেন ২ হাজার ৯৯৪ ভোট। বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাবেক মেয়র কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদ (ধানের শীষ) পেয়েছেন ১ হাজার ৭৭৬ ভোট। 

নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো. শুকুর মাহমুদ মিয়া ফলাফল ঘোষণা করেন। এসময় সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. আহসান ইকবাল উপস্থিত ছিলেন।

মোট ভোটার ছিলেন ২০ হাজার ৭৫৯। প্রদত্ত ভোট ১৪ হাজার ৮১০। বাতিল ভোট ৫১৭টি। শতকরা ৭১.৩৪% ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

বগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌরসভায় আ.লীগপ্রার্থী মতিউর বিজয়ী

বগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌরসভায় আ.লীগপ্রার্থী মতিউর বিজয়ী

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিদিনঃবগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মতিউর রহমান (নৌকা) ৬ হাজার ৫৭৪ ভোট পেয়ে বেসকারি ফলাফলে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্রপ্রার্থী আলমগীর শাহী সুমন (নারিকেল গাছ) পেয়েছেন ২ হাজার ৭৯৬ ভোট।

শনিবার সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সারিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ঝিকরগাছার শংকরপুর ইউনিয়নের বেতনা নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন

ঝিকরগাছার শংকরপুর ইউনিয়নের বেতনা নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার শংকরপুর ইউনিয়নের কুমরী গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া বেতনা নদী থেকে, অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গলি দেখিয়ে ড্রেজার মেশিন দিয়ে, বেতনা নদী থেকে প্রতিদিন বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে বেতনা নদীর পাশে অবস্থিত ঘরবাড়ী হুমকির মুখে পড়েছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকা বাসী।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, শংকরপুরের কুমরী গ্রামের রফিকের ছেলে জাহাঙ্গীর কবির, নিজের নব নির্মিত ভবনের নিচে ভরাট করার জন্য বেতনা নদী থেকে ড্রেজার বসিয়ে ১০ থেকে ১৫ দিন যাবত অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। প্রতিদিন বালু উত্তোলনের ফলে বিভিন্ন স্থাপনা হুমকির মুখে পড়েছে।

এদিকে অবৈধ বালু উত্তোলনের ফলে গ্রামের মানুষ খুবই চিন্তিত আছেন। ভুক্তভোগীরা জানান, ড্রেজার মেশিন পদ্ধতিতে বালু উত্তোলন করা হলে ভরা বর্ষায় তাদের বসত ভিটা বিলিন হতে পারে।

নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, ২০১০ সালে বালু উত্তোলন নীতিমালায় যন্ত্রচালিত মেশিন দ্বারা ড্রেজার পদ্ধতিতে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়াও সেতু, কালভার্ট, রেললাইনসহ মূল্যবান স্থাপনার এক কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন করা বেআইনি। অথচ নিজের স্বার্থ হাসিলের জন্য, সরকারি ওই আইন অমান্য করে কুমরী গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া বেতনা নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে বালু উত্তোলনকারী জাহাঙ্গীর বলেন,বালু উত্তোলন করা সমস্যা হলে বন্ধ করে দেব।ঝিকরগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরাফাত রহমান বলেন, বালু উত্তোলনের বিষয়টি আমার জানা ছিলো না। আপনাদের মাধ্যামে জানতে পারলাম। বিষয়টি তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঝিকরগাছার এক স্কুল ছাত্রীকে নায়িকা বানানোর স্বপ্ন দেখিয়ে ধর্ষণ থানায় অভিযোগ

ঝিকরগাছার এক স্কুল ছাত্রীকে নায়িকা বানানোর স্বপ্ন দেখিয়ে ধর্ষণ থানায় অভিযোগ

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের ঝিকরগাছার উপজেলার কৃতীপুর গ্রামের এক কিশোরী স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। রাজধানী ঢাকায় রুপালি পর্দার নায়িকা বানানোর স্বপ্ন দেখিয়ে, যশোর শহরের পুরাতন কসবা কাজীপাড়ার অভি ইসলাম প্রান্ত, নামের এই যুবক গত বৃহস্পতিবার তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী ঝিকরগাছার এক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী।
 
অভিযুক্ত অভি ইসলাম প্রান্ত ঝিকরগাছায় তার মামা কাজল রায়হানের বাড়িতে থাকেন। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র মাদকসহ অনুমানিক সাতটি মামলা রয়েছে। অভি ইসলাম প্রান্তর সদ্যবিবাহিত বলেও জানা গেছে। 

ঝিকরগাছা থানায় দায়ের করা অভিযোগের ওই স্কুলছাত্রী দাবি করেছে, অভি ইসলাম প্রান্তের মামা কাজল রায়হানের রাজধানী পান্থপথে একটি অ্যাড ফার্ম রয়েছে। সেখানে কাজের মাধ্যমে মিডিয়ায় নায়িকা বানানোর প্রতিশ্রুতি করে দেয়ার কথা বলে প্রান্ত, ওই ছাত্রীকে তার মামার বাসায় যেতে বলে। তাঁর কথামতো গত বৃহস্পতিবার বিকালে ওই বাড়িতে গেলে প্রান্ত তাকে জোর করে ধর্ষণ করে।
 
ঝিকরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রী নিজেই  থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে। আমরা যাচাই করে আইনগত পদক্ষেপ নেব।