বৃক্ষপ্রেমী এস এম আমিনুর রহমান (,বুলবুল) নজর কেড়ছে সবশ্রের্ণীপেশার মানুষের

বৃক্ষপ্রেমী এস এম আমিনুর রহমান (,বুলবুল)  নজর কেড়ছে সবশ্রের্ণীপেশার মানুষের

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ মানব ধর্ম বড় ধর্ম, মানুষকে ভালবাসা তার মধ্যে দিয়ে স্রষ্টাকে ভালবাসা"বৃক্ষ রোপন মানুষের জন্য সর্বশ্রেষ্ট শখ হিসাবে প্রধান্য দিলে আত্ম হৃদয়ে প্রকৃত শান্তি লাভ করা সম্ভাব।"
শ্যামনগর উপজেলায় ২০১৭ সালে নকিপুর খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার পাচবাকাবরশী গ্রামে ৭১রে রনাঙ্গানের বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম আব্দুল করিমের ২য় পুত্র এস এম আমিনুর রহমান বুলবুল। তিনি শ্যামনগরে দায়িত্বপালন কালে বিভিন্ন সামাজিক কাজে নিজেকে আত্মনিয়োগ করে যাচ্ছে ।নকিপুর খাদ্যগুদাম পরিদর্শক জীবনের শখ হিসাবে বৃক্ষরোপনকে বেচে নিয়েছে ।
তিনি অত্যান্ত সাদামাটা জীবন যাপন করেন, তিনি দুই সন্তানের জনক, নকিপুর খাদ্যগুদাম সহ বিভিন্ন স্থান সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, আমিনুর রহমান গুদামে চারিধারে বিভিন্ন  ফলজ, ঔষধি বৃক্ষরোপন করে সবুজের সমরাহে পরিনত করেছেন, তিনি অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসাবে হরিনগর খাদ্য গুদাম সহ ভেটখালী খাদ্যগুদামের দায়িত্ব পালনে সেখানে সবুজের সমাহরের  যে বাস্তব দৃশ্য সাধারন জনগনের নজর কেড়েছে তা থেকেও নিঃসন্দেহে বোঝা যায় তিনিই প্রকৃত একজন বৃক্ষপ্রেমিক।
তথ্যানুসন্ধানে আরো জানা যায়, খাদ্য গুদাম পরিদর্শক আমিনুর রহমান (বুলবুল)  শৈশবকাল থেকেই বৃক্ষরোপনকে নিজের শখ হিসাবে নির্বাচনে করে বিভিন্ন সময়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃক্ষরোপন করে জনসাধারনের নজর কেড়েছেন,  বৃক্ষপ্রেমী ব্যাক্তি শুধু বৃক্ষ রোপন করে ক্ষান্ত নয়,  নিজের বেতনের টাকা সঞ্চায় করে বিভিন্ন সময়ে অসহায় দারিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের সাহায্যে করে,  দারিদ্র গরীর অসুস্থ ব্যাক্তির সাহায্যে  এগিয়ে আসতে দেখা যায়। নিজের পরিবারে জন্য সাদামাটা খাওয়া দাওয়া ও জীবনযাপনের দৃশ্য দেখা যায়,  তিনি ধর্মীয় প্রতিষ্টানে তার অবদানের স্বাক্ষর রাখেন,  ভেটখালী মতিয়ার মাঝী দীর্ঘদিন খুব অসহায় জীবন যাপন করে আসছিলেন হঠাৎ একদিন খাদ্যগুদাম পরিদর্শক আমিনুর রহমানের নিকট দুঃখ বলতেই দুচোখের কান্নার জল এসে যায়,  খাদ্য গুদাম পরিদর্শক এস  এম আমিনুর রহমান (বুলবুল)  স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে সরকারী সাহায্যের ব্যবস্থা করেন।  তিনি  নকিপুর খাদ্যগুদামের ভেতরে পেয়রা, আম জাম কাঠাল জামরুল সহ নানান ধরনের গাছ লাগিয়েছেন।  তা ছাড়া কেশবপুর নিজ গ্রাম হতে তাল বীজ সংগ্রহ করে শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নে মাসুদ মোড় টু দ্বীপায়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় সড়কে প্রায় ৬০০০তাল বীজ রেপন করেন, শ্যামনগর টু নওয়াবেকী রোড়ে চুনার ব্রীজ সংলগ্ন ১০০০ হাজার তাল বীজ রোপন করেন এলাকাটি বর্জনিরোধক  করার জন্য তালবীজ বপন করেন। নওয়াবেকী টু কলবাড়ী সড়ক সংলগ্ন বৈদ্য বাড়ী রাস্তায় ও তালবীজ বপন করেছে।   এ ছাড়া তিনি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিজের সমার্থ অনুযায়ী ১০-২০-২৫টি করে বৃক্ষ রোপনের দৃশ্য দেখা গেছে উপজেলার জোবেদা সোহরাব মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে উল্লেখযোগ্য।  বিশেষ করে সৌদি খুরমা খেজুর সংগ্রহ করে, চারা উৎপাদন করে বিভিন্ন সম্মানিত ব্যাক্তির মাঝে দিয়েছেন ইতিমধ্যে।  
আসলে নকিপুর খাদ্যগুদাম ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম আমিনুর রহমান বুলবুলের মত রাষ্ট্রীয় কর্মকর্তার দায়িত্ব পালনে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসাবে এই অসাধারন কার্যক্রমকে সকলে সাধুবাদ জানায়। 
আসলে সরকারী কর্মকর্তা হিসাবে সকল মুক্তিযোদ্ধার সন্তান যদি আমিনুর রহমানের মত সামাজিক কাজে এগিয়ে আসে তাহলে অব্যশই অতি দ্রুত গতিতে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়া সম্ভাব হবে।সত্যিইকার অর্থে তিনি একজন বৃক্ষপ্রেমী মানুষ।

রাণীশংকৈলে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের শীতবস্ত্র ও মাস্ক বিতরণ

রাণীশংকৈলে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের শীতবস্ত্র ও মাস্ক বিতরণ

কলিন চন্দ্র (ইতু) রায়, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি
ঃ ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে উপজেলায় দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকার উপজেলা শুভসংঘের উদ্যোগে ২ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার বিকালে পৌর শহরের বন্দরে কম্বল ও মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। "শুভ কাজে সবার পাশে" এই স্লোগানকে সামনে রেখে কালের কন্ঠ শুভসংঘ বন্ধুদের সহায়তায় আয়োজিত কম্বল ও মাস্ক বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি সেলিনা জাহান লিটা, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহরিয়ার আজম মুন্না, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির স্টিভ, ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল রানা ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শেফালি বেগম, বীর মুক্তিযোদ্ধা হবিবর রহমান ও আবু সুফিয়ান প্রমুখ ।

এছাড়াও প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি দৈনিক ইত্তেফাক প্রতিনিধি অধ্যাপক আনোয়ারুল ইসলাম, শুভ সংঘের সভাপতি উপাধ্যক্ষ মহাদেব বসাক, প্রেস ক্লাব পুরাতন"র সভাপতি কুসমত আলী ও সাধারণ সম্পাদক দৈনিক কালেরকণ্ঠ প্রতিনিধি সফিকুল ইসলাম শিল্পি, ডেইলি সান প্রতিনিধি হুমায়ুন কবির, দৈনিক দাবানল প্রতিনিধি রফিকুল ইসলাম সুজন ও দৈনিক গনকন্ঠ প্রতিনিধি মাহবুব আলমসহ শুভ সংঘের বিভিন্ন সদস্য এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন ।


 
প্রসঙ্গত এ কার্যক্রমের আওতায় ২০০ জন বয়স্ক ও অসহায় নারী পুরুষ ও ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে কম্বল ও মাস্ক বিতরণ করা হয়।

মোংলায় সিপিবি'র পল্টন হত্যাকান্ডে শহীদ বিপ্রদাসের মৃত্যু বার্ষিকী পালন

মোংলায় সিপিবি'র পল্টন হত্যাকান্ডে শহীদ বিপ্রদাসের মৃত্যু বার্ষিকী পালন

মোংলা প্রতিনিধিঃ সিপিবি'র পল্টন হত্যাকান্ডে শহীদ বিপ্রদাসের ২০তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে ২ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার দুপুরে কাপালিরমেঠ গ্রামে শহীদ বিপ্রদাসের বাড়ীতে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি এবং বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন মোংলা শাখার যৌথ আয়োজনে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন, আলোচনা সভা ও গণভোজ অনুষ্ঠিত হয়। 

মঙ্গলবার দুপুর ১টায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি মোংলা শাখার নেতা কমরেড বিজয় কৃষ্ণ মজুমদার। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সিপিবি খুলনা জেলা কমিটির নেতা কমরেড শেখ আব্দুল হান্নান, বাগেরহাট জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফররুখ হাসান জুয়েল, সিপিবি নেতা কমরেড কিশোর রায়, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক কেন্দ্রিয় সাধারণ সম্পাদক মোঃ নূর আলম শেখ, ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক খুলনা জেলা সভাপতি দুলাল দেবনাথ, সিপিবি নেতা নাজমুল হক, ছাত্র ইউনিয়নের খুলনা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৌমিত্র সৌরভ, যুব ইউনিয়ন নেতা মারুফ বিল্লাহ প্রমূখ। আলোচনা সভায় বক্তারা শহীদ বিপ্রদাসের স্বপ্ন শোষণহীন-শ্রেণীহীন সাম্যবাদী শান্তির সমাজ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে সামিল হওয়ার ছাত্র-তরুনদের প্রতি আহ্বান জানান। আলোচনা সভার আগে সিপিবি ও ছাত্র ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ শহীদ বিপ্রদাসের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করেন এবং শোষনহীন সমাজতান্ত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামের নিজেদের উৎসর্গ করার শপথগ্রহণ করেন। সবশেষে গণভোজ অনুষ্ঠিত হয়।

ফলোআপঃ বগুড়ায় ‘বিষাক্ত মদপানে’ মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০

ফলোআপঃ বগুড়ায় ‘বিষাক্ত মদপানে’ মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ায় 'বিষাক্ত মদপানে' মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রথম দফায় রবিবার ও সোমবার সাতজনের মৃত্যু হয়। পরে মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও তিনজনের মৃত্যু হয়। গত ৩১ জানুয়ারি রাতে পুরান বগুড়া, ভবের বাজার, কাহালু, ফুলবাড়ি ও কাটনারপাড়া এলাকায় আলাদা ঘটনায় তাদের মৃত্যু হয়। শহরের পুরান বগুড়ার তিনমাথা এলাকার বাসিন্দা হরিনাথ বলেন, 'রবিবার রাতে তিনমাথা এলাকায় একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে আগত লোকজন পার্শ্ববর্তী এক হোমিও দোকান থেকে অ্যালকোহল কিনে পান করেন। রাতে বাড়ি ফেরার পর সুমন, তার বাবা প্রেমনাথ, চাচা রামনাথ, প্রতিবেশী রমজান ও ব্যবসায়ী আলমগীর অসুস্থ হয়ে পড়েন।' সোমবার ভোরে তাদের বগুড়ার শহিদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যালে নিয়ে যাওয়া হলে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমনকে মৃত ঘোষণা করেন। রমজান স্থানীয় এক ক্লিনিকে মারা যান। রাতে হোটেল ব্যবসায়ী আলমগীর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। পরে মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও তিনজনের মৃত্যু হয়।

সাতক্ষীরার তালায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী শোভাযাত্রা ও পথসভা

সাতক্ষীরার তালায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী শোভাযাত্রা ও পথসভা

নিজস্ব সংবাদদাতা  : সাতক্ষীরার তালায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী শোভাযাত্রা ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার তালা সদর ইউনিয়ন পরিষদের জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান, সাংবাদিক এস এম নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে কয়েক হাজার নেতাকর্মী শোভাযাত্রায় অংশ নেন।

তালা সদরের মাঝিয়াড়া বাজার থেকে মটরসাইকেল শোভাযাত্রাটি বের হয়ে তালা সদর ইউনিয়নের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। তালা উপজেলা সদরসহ বাজার বিভিন্ন মোড়ে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। সহস্রাধীক মোটরসাইকেলে যোগে জাতীয় পার্টির অঙ্গ ,সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী ও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ এতে অংশগ্রহণ করেন।

পথসভায় তালা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী, উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান এস.এম নজরুল ইসলাম বলেন, তালার মানুষ আজ সন্ত্রাসীদের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে। এদের হাত থেকে তালাকে মুক্ত করতে তালার মানুষ এখন একাট্টা। শুধু আগামী ২২ মার্চের ভোটের দিনের অপেক্ষা করছে।

তিনি বলেন, আমার হাত দিয়ে তালার দীর্ঘদিনের জলাবদ্ধতা সমস্যার সমাধান হয়েছে। চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে ৭৮ টি ব্রিজ কালভার্ট নির্মাণ করে এই অঞ্চলকে জলাবদ্ধতার হাত থেকে মানুষকে মুক্ত করেছিলাম। আগামী দিনে তালা সদর ইউনিয়ন পরিষদে উন্নয়ন ও সুশাসন পেতে লাঙ্গল প্রতীকে ভোট দিন।

ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল হক বিশ্বাস আর নেই

ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল হক বিশ্বাস আর নেই

মোঃ ইকরামুল করিম, ঝিকরগাছা প্রতিনিধিঃঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল হক বিশ্বাস বার্ধক্যজনিত কারণে মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) বিকালে নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেছেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল হক বিশ্বাস ছিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ১৯৬৬-১৯৭৪ সাল পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন , এছাড়া তিনি সরকারী এম এম কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জিএস ছিলেন৷

দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে তিনি সমাজ সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছিলেন এছাড়া ঝিকরগাছা বাসস্ট্যান্ড জামে মসজিদ কমিটির দীর্ঘদিনের সভাপতি, ঝিকরগাছা-শার্শা-বেনাপোল ট্রাক মালিক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি ঝিকরগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বাপ্পী'র চাচা।

মৃত্যুকালে তিনি তিন ছেলে ও এক মেয়ে সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

নন্দীগ্রামে জনগণের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন, নব নির্বাচিত মেয়র আনিছুর রহমান

নন্দীগ্রামে জনগণের সাথে সৌজন্য  সাক্ষাৎ করেন, নব নির্বাচিত মেয়র আনিছুর রহমান

আব্দুল আহাদ,নন্দীগ্রাম (বগুড়া )প্রতিনিধি:বগুড়ার নন্দীগ্রাম পৌরসভার  নব নির্বাচিত মেয়র আনিছুর রহমান । গত ৩০শে জানুয়ারি নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর থেকেই আনিছুর রহমান'র বাসায় ভিড় করছেন দলীয় নেতাকর্মী ও উৎসুক জনতা। প্রতিদিন অসংখ্য নেতাকর্মী বাসভবনে নতুন মেয়রের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে যান। জানান অভিনন্দন। তাদেরকে নিয়েই আনিছুর রহমান নন্দীগ্রাম পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের  উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন । নব নির্বাচিত মেয়র আনিছুর রহমান বলেন, নাগরিক দায়িত্ববোধ থেকেই নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর থেকেই নন্দীগ্রাম পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ডের জনগণের  সাথে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সৌজন্য  সাক্ষাৎ করছি ।নন্দীগ্রাম পৌরসভা কে মাদক, সন্ত্রাস ও দূর্নীতিমুক্ত পৌরসভা  গঠনে সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা  করছি।আমি ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা ও এলাকার সার্বিক উন্নয়ন এবং সমস্যা সমাধানে সকলকে সাথে নিয়ে কাজ করতে চাই। এলাকার শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে যুব সমাজ ও গণ্যমান্য  ব্যক্তিদের সাথে নিয়ে অত্র পৌরসভাকে মাদক, সন্ত্রাস ও দূর্নীতিমুক্ত সমাজ ব্যবস্থা এবং এর বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে চাই।এলাকার সকল অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গ্রামে গ্রামে নারী নির্যাতন বন্ধে আইনী ভাবে মানুষকে সজাগ করে তোলা সহ সকল সমাজ বিরোধী কাজ বন্ধের পদক্ষেপ গ্রহন করতে চাই।তিনি আরোও বলেন,তরুনরাই হচ্ছে আগামী দিনের দেশ গড়ার কারিগর, তাই সকল কাজে এবং আলোকিত সমাজ গড়তে তরুন নেতৃত্বের গুরুত্ব অপরিসীম। আমি সমাজের সার্বিক উন্নয়ন ও গরীব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়াতে আসন্ন নন্দীগ্রাম পৌরসভা  নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী হিসেবে সকলের দোয়া ও সমর্থন কামনা করছি। নন্দীগ্রাম পৌরসভা কে মাদক, সন্ত্রাস ও দূর্নীতিমুক্ত করতে আপনাদের সহযোগিতা কামনা করছি।

আশাশুনিতে যুবলীগ নেতা তৈবারের পিতা আসাদুর রহমানের দাফন সম্পন্ন

আশাশুনিতে যুবলীগ নেতা তৈবারের পিতা আসাদুর রহমানের দাফন সম্পন্ন

আহসান উল্লাহ বাবলু , আশাশুনু সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: আশাশুনি সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি তবিবুর রহমান তৈবারের পিতা আসাদুর রহমান আর নেই।  পরিবার সুত্রে জানা গেছে আশাশুনির সদরের মরহুম মুনছুর আলী সরদারের বড় পুত্র উপজেলা আ'লীগের সাবেক কার্যনির্বাহির কমিটির সদস্য আসাদুর রহমান আসাদ (৫২) ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ভোর রাতে ৪ টা ৩০ মিনিটে নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহে--------- রাজেউন) মৃত্যুকালে স্ত্রী, ৩পুত্র ও ২কন্যা সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী মঙ্গলবার পারিবারিক কবরস্থানে জানাযার নামাজ শেষে দাফন করা হয়। মাওঃ নুর ইসলামের পরিচালনায় জানাযার নামাজে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ'লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম রেজা মিলন, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল হান্নান, উপজেলা আ'লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রিপোর্টাস ক্লাবের সেক্রেটারি আব্দুস সামাদ বাচ্চু, জেলা পরিষদের সদস্য উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মহিতুর রহমান, সাবেক অধ্যক্ষ আব্দুর সবুর, সাইদুল ইসলাম,বীরমুক্তিযোদ্ধা নুরুল হুদা, জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুল হাকিম, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ঢালী সামছুল আলম, থানা জামে মসজিদের ইমাম প্রভাষক হাফেজ বাকিবিল্লাহ ওয়াপদা জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ আব্দুর রউফ, আলহাজ অজিহার রহমান, শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ,শিক্ষক রফিকুল ইসলাম মজনু, জাতিয় পার্টির সভাপতি রহুল আমীন, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল বাশার,যুবলীগ নেতা আহসান উল্লাহ আছু, মিজানুর রহমান, আছাদুজ্জামান খোকন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এস এম সাহেব আলী, রিপোর্টাস ক্লাবের সহ-সভাপতি এম এম সাহেব আলী, সাংবাদিক বাহাবুল হাসনাইন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আছমাউল হুসাইন সহ মসুল্লিবৃন্দ।

কালীগঞ্জের বেদে পল্লীতে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন পুলিশ সুপার

কালীগঞ্জের বেদে পল্লীতে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন পুলিশ সুপার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহে বেদে সম্প্রদায়ের শীতার্তদের মাঝে পুলিশের পক্ষ থেকে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। বাংলাদেশ পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমানের সহযোগিতায় উত্তরণ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এ শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। সেসময় বেদে পল্লীতে অসহায় ৫ শতাধিক মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র তুলে দেন পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ার সাঈদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আবুল বাশার, কালীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি জামির হোসেন, কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাঃ মাহফুজুর রহমান মিয়া, ওসি তদন্ত মতলেবুর রহমান। শীতবস্ত্র পেয়ে খুশি অসহায় পরিবারগুলো।

ঝিনাইদহে বাড়ছে ডায়রিয়া আক্রান্ত শিশু রোগীর সংখ্যা

ঝিনাইদহে বাড়ছে ডায়রিয়া আক্রান্ত শিশু রোগীর সংখ্যা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহে গত কয়েদিনে ঠান্ডাজনিত কারণে শিশু রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। প্রতিদিনই সদর হাসপাতালে নতুন নতুন রোগী ভর্তি হচ্ছে। এদের মধ্যে বেশিরভাগ শিশু নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে আসছে। বর্তমানে শিশু বিভাগে আট শয্যার বিপরীতে ভর্তি রয়েছে ৫৯ জন। এরমধ্যে ডায়রিয়া আক্রান্ত ২৫ এবং বাকি ৩৪ শিশু নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত প্রতিদিনই গড়ে ২৫ জন ভর্তি হচ্ছে আর ২০ শিশু ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে ফিরছে। এ ছাড়া প্রতিদিনই বহি:বিভাগও জরুরী বিভাগের মাধ্যমেও দেড়শতাধীক শিশু চিকিৎসা সেবা নিচ্ছে বলে জানিয়ে হাসপালটির শিশু বিভাগের চিকিৎসকরা। ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা: আনোয়ারুল ইসলাম জানান, বর্তমানে শিশুদের মধ্যে ঠান্ডা জনিত কারণে ডায়রিয়া রোগটা বেশী বেড়েছে। সাথে রয়েছে নিউমোনিয়া। এমন অবস্থায় তাদের সাধ্যমত চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। তবে শয্যার তুলনায় রোগী বেশী থাকায় একটু সমস্যা হচ্ছে। তবে শিশুদের শারীরিক ভাবে স্বুস্থ রাখতে হাসি, কাশি, ঠান্ডা থেকে দুরে রাখতে অভিভাবকদের নানা পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

রাজাপুরে হতদরিদ্র ও প্রতিবন্ধী শীতার্তাদের মাঝে কম্বল বিতরণ

রাজাপুরে হতদরিদ্র ও প্রতিবন্ধী শীতার্তাদের মাঝে কম্বল বিতরণ

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার:ঝালকাঠির রাজাপুরে উদয়ন সমাজ উন্নয়ন সংস্থা বাংলাদেশ কর্তৃক আয়োজনে বিভিন্ন স্থানে কয়েক হাজার কম্বল বিতারন করা হয়েছে। উপজেলার সদরের প্রতিবন্ধী ও হতদরিদ্র শীতার্তদের মাঝে রাজাপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে এই শিতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব মোহাম্মদ মোক্তার হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মোঃ জিয়া হায়দার খান লিটন ভাইস চেয়ারম্যান উপজেলা পরিষদ রাজাপুর ও  সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাজাপুর উপজেলা শাখা।

রাজাপুর অটিস্টিক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় প্রঙ্গনে স্থানীয় প্রতিবন্ধী ও হতদরিদ্র শীতার্তদের মাঝে উদয়ন সমাজ উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোঃ মিরাজ খান,বি এন আই এম সোসাইটি বাংলাদেশ এর নির্বাহী পরিচালক জনাব মোঃরুহুল আমিন বাচ্চু,সাজ্জাদ হোসেন ও হাফিজুর রহমান উপস্থিত থেকে এ শিতবস্ত্র বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বীর মুক্তিযুদ্ধা সাবেক ওসি জনাব মোঃ মনোয়ার হোসেন মিঞা।

উদয়ন সমাজ উন্নয়ন সংস্থা বাংলাদেশ কর্তৃক, আঙ্গারিয়া উদয়ন সমাজ উন্নয়ন সংস্থা নির্বাহী কার্যালয় প্রতিবন্ধী ও হতদরিদ্র শীতার্তদের মাঝে,এই শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব রাজন কুমার দাস এজিএম পল্লী বিদ্যুৎ রাজাপুর। উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জনাব মোঃ মিরাজ খান নির্বাহী পরিচালক উদয়ন সমাজ উন্নয়ন সংস্থা বাংলাদেশ। এছাড়া ফুলহার গ্রামে অসহায় প্রতিবন্ধী ও হতদরিদ্রদের এবং গালুয়া এমদাদুল উলুম কওমি মাদ্রাসায় হেবজুল কুরআন শিক্ষার্থীদের মাঝে কম্বল বিতরন করা হয়েছে।

নন্দীগ্রামে ধুমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটির ১৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠিত

নন্দীগ্রামে ধুমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটির ১৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠিত

নন্দীগ্রাম (বগুড়া)প্রতিনিধি:ধুমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটির ১৯তম প্রতিষ্ঠাতা বার্ষিকী অনুষ্ঠিত হয়েছে।১ ফেব্রুয়ারি সোমবার বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার দাসগ্রাম সোনার বাংলা ক্লাবে এই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ধুমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ভাটারা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম এর নির্দেশে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সংগঠনটির সফলতা কামনা করেন ধুমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ভাটারা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম।ধূমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটির নন্দীগ্রাম উপজেলা শাখার মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মোছাঃ রোকেয়া খাতুন কেয়া সঞ্চালনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন,জনপ্রিয় অনলাইন প্রএিকা আজকের সংবাদ বিডি ডটকম'র প্রকাশক ও সম্পাদক এবং সার্বিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি ও ধুমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটি, বগুড়া জেলা শাখা প্রচার-প্রকাশনা সম্পাদক -(নিসচা) বগুড়া জেলা শাখার নির্বাহী সদস্য ধূমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটির নন্দীগ্রাম উপজেলা শাখার সভাপতি  মোঃ আব্দুল গফুর ।বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, নন্দীগ্রাম উপজেলা ইউনাইটেড প্রেসক্লাব ও আরজেএফ সংগঠনের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও ধূমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটির উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আহাদ। এছাড়া ও বক্তব্য রাখেন,মোঃ শাহিন আলম সাজু সহ-সভাপতি মোঃ আব্দুল আলীম সহ সভাপতি, মোঃ মুমিন সহ-সাধারণ সম্পাদক মোঃ সবুজ আলী সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ রাসেল আহমেদ প্রচার সম্পাদক মোঃ সজীব, সহ -প্রচার সম্পাদক মুফতি মোঃ আলমগীর জাহান ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা মোঃ কাওছার আলী সহ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শফিকুল ইসলাম দপ্তর সম্পাদক মোঃ পারভেজ আলী ক্রিড়া সম্পাদক  মোঃ ইব্রাহিম সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক। বক্তারা বলেন, আজকের শিশু আগামি দিনের ভবিষ্যৎ, সকল পিতা মাতার উদ্দেশ্যে  বলে আপনারাই পারেন আপনার সন্তানদের ধুমপান থেকে মুক্ত করাতে,আর যাহারা ধুমপান করেন সবাই তওবা করেন আর কোন দিন ধুমপান করবেন না, ধুমপানে অনেক ক্ষতির কারণ রয়েছে,আসুন সকল নেশা ছেড়ে ধুমপান মুক্ত দেশ গড়ি।

ঝিকরগাছায় গ্রাম্য পশু চিকিৎসক আমিনুরের ভিজিটিং কার্ডে সরকারি লোগো

ঝিকরগাছায় গ্রাম্য পশু চিকিৎসক আমিনুরের ভিজিটিং কার্ডে সরকারি লোগো

আফজাল হোসেন চাঁদ : ঝিকরগাছায় সরকারি কর্মকর্তা না হয়েও ভিজিটিং কার্ডে সরকারি লোগো ব্যবহার করছে আমিনুর রহমান নামের এক গ্রাম্য পশু চিকিৎসক। সে সরকারী লোগে ব্যবহার করে এলাকার বিভিন্ন মানুষের সাথে অবাধে প্রতারণা শুরু করেছেন। তার গ্রামের বাড়ি মনিরামপুর উপজেলার সালামতপুর। বর্তমানে তিনি পৌরসদরের কীর্তিপুর গ্রামে বসবাস করেন। নিজেকে এলাকার মানুষের নিকট বড় মাপের ব্যক্তি বানাতে ভিজিটিং কার্ডে সরকারি লোগো ব্যবহারের মাধ্যমে উপজেলা ও পৌরসদরের বিভিন্ন এলাকায় গবাদি প্রাণি চিকিৎসক ও সরকারি প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত বলে প্রচার করে সাধারণ মানুষকে হয়রানী করছে। এই বিষয়ে এলাকার সচেতন মহল আমিনুর রহমান নামের এই গ্রাম্য পশু চিকিৎসকের শাস্তির দাবি করেছেন।
গ্রাম্য পশু চিকিৎসক আমিনুর রহমান জানান, আমি কোনো সরকারি কর্মকর্তা না। আমি যুব উন্নয়ন, সাফি মেডিকেল ও ঝিকরগাছা হাসপাতাল থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছি। যুব উন্নয়ন ও সাফি মেডিকেল থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে আরো ভালোভবে শেখার জন্য হাসপাতালে পাঠায়। তারপর বড় বড় টিএনও, সার্জেন অফিসার আছে তাদের সাথে দেখে দেখে হাসপাতালে অনেক রোগী আসে আমরা সেগুলো দেখি। ভিজিটিং কার্ডে সরকারি লোগো ব্যবহারের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, এই মনোগ্রামটা কায়েমকোলাতে বানাইছে। আমি এতে মনোগ্রাম দেয়নি।
উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসার তপনেশ্বর রায় জানান, সরকারি কর্মকর্তা ছাড়া এই লোগো ব্যবহারও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। আইনত এভাবে লেখার নিয়ম নেই। যদি আইনি প্রক্রিয়ায় যাওয়া হয়, তবে এটি একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে অভিযোগ করলে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরাফাত রহমান জানান, এটি যদি কেউ করে থাকে, তবে তা দুর্ভাগ্যজনক এবং এটি অনৈতিক। ডিগ্রি অর্জন না করেও ব্যক্তিগত ভিজিটিং কার্ডে সরকারি লোগো ব্যবহারের বিষয়টি আমি জানতাম না। যেহেতু আপনারা আমাকে অবগত করলেন সেহেতু আমি উক্ত বিষয়টির বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করিবো।

নন্দীগ্রাম উপজেলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

নন্দীগ্রাম উপজেলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

আব্দুল আহাদ,নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি:বগুড়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক করতোয়ার সম্পাদক মোজাম্মেল হককে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে তার নাম ব্যবহার করে পুন্ড্র ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষের প্রতারণামূলক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে নন্দীগ্রাম উপজেলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে নন্দীগ্রাম বাসষ্ট্যান্ড বঙ্গবন্ধু চত্বরের সামনে মানববন্ধন শেষে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন নন্দীগ্রাম উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক ও দৈনিক করতোয়ার প্রতিনিধি বকুল হোসেন।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ফজলুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক ও ভোরের দর্পনের প্রতিনিধি ফিরোজ কামাল ফারুক, নির্বাহী সদস্য জুলফিকার আলী, আব্দুল হাকিম, আবু হানিফ প্রমূখ।উক্ত সমাবেশে উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

মোংলায় কম্বল পেলো ৯০০শ অসহায় ও হতদরিদ্র শীতার্থ মানুষ

মোংলায় কম্বল পেলো ৯০০শ অসহায় ও হতদরিদ্র শীতার্থ মানুষ

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ
প্রচন্ড শীতে যখন যুবুথুবু মোংলার অসহায় ও হতদরিদ্র শীতার্থ মানুষ, ঠিক তখন শীত নিবারনে তাদের মাঝে কোম্বল নিয়ে হাজির হলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক 

 মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে স্থানীয় আওয়ামীলীগ দলীয় কার্যালয়ে মোংলা পোর্ট পৌরসভার  ৯০০শ অসহায় ও হতদরিদ্র   শীতার্থ নারী পুরুষের  মাঝে এ কোম্বল বিতরন করা হয়। 

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ বেগম হাবিবুন নাহারের উপহার হিসেবে পাঠানো এ কোম্বল অসহায় ও হতদরিদ্র শীতার্থ মানুষের হাতে তুলে দেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। কোম্বল পেয়ে খুশি ছিন্নমুল এসব অসহায়রা। 

শীতের এ ত্রানবস্ত্র বিতরনকালে আরও উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, নব নিবার্চিত পৌর মেয়র শেখ আ: রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ ইব্রাহিম হোসেন, আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম সহ মোংলা পোর্ট পৌরসভার নব নির্বাচিত কাউন্সিলর বৃন্দ।

কালীগঞ্জ বেদে সম্প্রদায়ের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম

কালীগঞ্জ বেদে সম্প্রদায়ের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃঝিনাইদহের কালীগঞ্জ কাশিপুর ও উপজেলার বারোবাজার এলাকার পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী "বেদে পল্লীর" মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে "উত্তরণ ফাউন্ডেশন" ঢাকা রেঞ্জের ডি আই জি ও উত্তরণ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জনাব হাবিবুর রহমান এর নির্দেশনা ও সহযোগিতায় এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। 
অনুষ্ঠানের সভাপতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার জনাব মুনতাসিরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আনোয়ার সাইদ, অপরাধ ও প্রশাসন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আবুল বাশার ও কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মাহফুজুর রহমান মিয়া ও গণমাধ্যম কর্মীসহ পুলিশের সদস্যরা। 
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীদের পাশে দাড়িয়ে তাদেরকে সহায়তা দেওয়ার জন্য এই ফাউন্ডেশন গঠন করেন পুলিশের ঢকা রেঞ্জের ডি আই জি হাবিবুর রহমান। তারই ধারাবাহিতায় আজকের এই শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তারা সমাজের বিত্তশালী মানুষদের প্রতি সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের পাশে দাড়াতে আহবান জানান।  
অনুষ্ঠান শেষে পুলিশের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে বেদে সম্প্রদায়ের ৫ শ জন মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম।

যৌতুকের জন্য অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা: স্বামীর ফাঁসির আদেশ

যৌতুকের জন্য অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা: স্বামীর ফাঁসির আদেশ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃপ্রেম করে বিয়ে। দেড় বছরের সংসার জীবন। তবে প্রথম থেকেই ছিল যৌতুকের জন্য নির্যাতন। জীবন বাঁচতে ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা পিংকি খাতুন শিল্পী (২২) ফিরে আসেন বাবা-মায়ের কাছে। কিন্তু তাতেও ক্ষান্ত হয়নি স্বামী রাসেল বাবু (৩৪)। শ্বশুরবাড়িতে এসে স্ত্রীকে পেটের সন্তান নষ্ট করার জন্য চাপ দিতে থাকে। শিল্পীকে নিজ বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে বিভিন্নভাবে ফুসলাতে থাকে। শ্বশুরবাড়িতে এসে থাকাও শুরু করে। কিন্তু কিছুতেই বনিবনা হচ্ছিল না।
এমন পরিস্থিতিতে একদিন শিল্পীর বাবা-মা বাড়িতে না থাকার সুযোগ নিয়ে রাসেল বাবু তার স্ত্রী শিল্পীকে জোর করে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্ট করে। শিল্পী এতে রাজি না হওয়ায় বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে রাসেল বাবু অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে এবং মুখে বালিশ চাপ দিয়ে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে। মরদেহ খাটের ওপর রেখে পালিয়ে যায় সে।
২০১১ সালের ২৭ মে সংঘটিত এই হত্যাকাণ্ডের বিচার চেয়ে ওই দিনই পিংকি খাতুন শিল্পীর মা রোকেয়া বেগম বাদী হয়ে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী থানায় মামলা করেন। প্রায় ১০ বছর মামলার শুনানি ও সাক্ষ্য প্রমাণে এই হত্যাকাণ্ডে রাসেল বাবুর জড়িত থাকার বিষয়টি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়। ফলে আসামি রাসেল বাবুকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল মান্নান এ আদেশ দেন। পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্রাহাম লিংকন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
আদালত সূত্র জানায়, ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি রাসেল বাবু বর্তমানে পলাতক রয়েছে। তার অনুপস্থিতিতেই আদালত এই আদেশ দিয়েছেন।
হত্যাকাণ্ডের শিকার পিংকি খাতুন শিল্পী জেলার ভূরুঙ্গামারী উপজেলার পাথরডুবি ইউনিয়নের দক্ষিণ পাথরডুবি গ্রামের হাতেম আলী- রোকেয়া বেগম দম্পতির মেয়ে। আর ঘাতক স্বামী রাসেল বাবু নাগেশ্বরী উপজেলার নাখারগঞ্জ বাজার এলাকার সাইফুর রহমানের ছেলে।
এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন পিপি আব্রাহাম লিংকন এবং আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট ফখরুল ইসলাম ও সিদ্দিকুর রহমান।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার সহায়তায় শ্যামনগরে সামুদ্রিক শৈবাল চাষের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার সহায়তায় শ্যামনগরে সামুদ্রিক শৈবাল চাষের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি: জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার সহায়তায় শ্যামনগরে সামুদ্রিক শৈবাল চাষের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

সাতক্ষীরা,শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের কলবাড়ীস্থ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সিডিও ইয়ুথ টিমের প্রধান কার্যালয় মিলনায়তনে বেলা ১১ টায় অনুষ্ঠিত উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (খুলনা) এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. হারুন-অর-রশিদ এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ এগ্রিকালচার রিসার্চ সেন্টার (বিএআরসি) পরিচালক ড. আব্দুস সালাম। 

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, সামুদ্রিক শৈবাল উপকূল অঞ্চলের লবণ পানিতে জন্ম নেওয়া এক ধরনের উদ্ভিদ। পুষ্টিগুণে ভরপুর এক অনন্য খাদ্য। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সামুদ্রিক শৈবাল প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় অন্যতম উপাদান হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। বাংলাদেশে সামুদ্রিক শৈবাল চাষ প্রযুক্তি নতুন এবং মূলত কক্সবাজার ভিত্তিক। সামুদ্রিক শৈবাল চাষের জন্য সাতক্ষীরার শ্যামনগর অঞ্চল হতে পারে গুরুত্বপূর্ণ চাষ ক্ষেত্র। 

উপকূলীয় এলাকার ৩০ জন কৃষক ও মৎস্যজীবিদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার সামুদ্রিক শৈবাল প্রকল্পের ন্যাশনাল কনসালটেন্ট এবং শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকোয়াকালচার বিভাগের চেয়ারম্যান ড. এ এম শাহাবউদ্দিন, সামুদ্রিক শৈবল প্রকল্পের ন্যাশনাল প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর ও বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল এর পরিচালক ড. কবির উদ্দিন আহমেদ। 

বক্তারা বলেন, সামুদ্রিক শৈবাল প্রকল্প টি জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা আর্থিক সহযোগিতায় এবং বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল ও বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট, মৎস্য অধিদপ্তর, কৃষি অধিদপ্তর এর সহযোগিতায় বাস্তবায়িত হচ্ছে। সাতক্ষীরার শ্যামনগর ও নদীতীরবর্তী এলাকার জনগণের জন্য এটি একটি নতুন বিষয়। তাই এই অঞ্চলের মৎস্যজীবীদের এবং কৃষকদের জন্য বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হিসেবে সামুদ্রিক শৈবাল চাষ হতে পারে। সাথে সাথে এর প্রচার ও প্রসার হলে এ অঞ্চলের জনগণের পুষ্টির চাহিদা মেটানোর জন্য সামুদ্রিক শৈবাল ব্যবহৃত হতে পারে। 

উল্লেখ্য, সামুদ্রিক শৈবাল রশির মধ্যে বেঁধে লবণাক্ত পানিতে ভাসমান অবস্থায় স্থাপন করে দিলে প্রতি ১৫ দিন পর পর তা আহরণ করা যায়। এটি চাষে বিনিয়োগ খুবই কম কিন্তু এর উৎপাদন ক্ষমতা অনেক বেশি। সরকারের ব্লু-ইকোনমিতে সামুদ্রিক শৈবাল একটি উল্লেখযোগ্য উপাদান হতে পারে বলে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ মনে করেন।

সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. কামরুল ইসলাম।

মোংলায় বিশ্ব জলাভূমি দিবসে সুন্দরবনের জীববৈচিত্র সংরক্ষনের আহ্বান

মোংলায় বিশ্ব জলাভূমি দিবসে সুন্দরবনের জীববৈচিত্র সংরক্ষনের আহ্বান

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ 
১৯৯২ সাল থেকে সুন্দরবনকে রামসার কনভেনশন অনুয়ায়ি আন্তর্জাতিক ভাবে স্বীকৃত জলাভূমি হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। জলাভূমির টেকসই ব্যবহার ও সংরক্ষণের জন্য ১৯৭১ সালের রামসার চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। অপরিকল্পিত শিল্পায়ন ও নানামুখি কর্মকান্ডে বর্তমানে সুন্দরবন বিপদাপন্ন। সুন্দরবনের জীববৈচিত্রসহ খাদ্য নিরাপত্তার জন্য জলাভূমি সংরক্ষণের জন্য সরকারসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে উদ্যোগী হতে হবে। ২ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার সকালে আন্তর্জাতিক জলাভূমি দিবস উপলক্ষে পশুর রিভার ওয়াটারকিপার, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) এবং ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশের আয়োজনে মোংলা বাসস্ট্যান্ডে মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তারা একথা বলেন।

মঙ্গলবার সকাল ১১টায় মানববন্ধন চলাকালে সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) মোংলা কমিটির আহ্বায়ক পশুর রিভার ওয়াটারকিপার মোঃ নূর আলম শেখ। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কৃষক নেতা অবনী হালদার, বাপা নেতা নাজমুল হক, কমলা সরকার, মিনু হালদার, জেলে সমিতির নেতা নজরুল ইসলাম, মৌয়াল ষ্টিফেন হালদার, ঢাংমারি ডলফিন সংরক্ষণ দলনেতা ইস্রাফিল বয়াতি, পশুর রিভার ওয়াটারকিপার ভলান্টিয়ার মাহরুফ বিল্লাহ, মেহেদী হাসান বাবু, রমেশ শীল, বিপ্লব মিস্ত্রি প্রমূখ। সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে বাপা নেতা মোঃ নূর আলম শেখ বলেন পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা, জীববৈচিত্র, কৃষি, মৎস, পর্যটনসহ নানাক্ষেত্রে এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হলো জলাভূমি। বাংলাদেশের প্রাণ জলাভূমি তথা সুন্দরবন, নদী-নালা, খাল-বিল-হাওরের পরিবেশ ও জীববৈচিত্র সংরক্ষনের কোন বিকল্প নেই। মানববন্ধন ও সমাবেশে সুন্দরবনের উপর নির্ভরশীল কয়েকশো জেলে-বাওয়ালী-মৌয়ালী-বনজীবি-মৎসজীবি নানা শ্লোগান সম্বলিত প্লাকার্ড-ফেস্টুন হাতে উপস্থিত ছিলেন।

মুনসুর আহমেদ'র মত্যুতে আশাশুনি আওয়ামীলীগের শোক জ্ঞাপন

মুনসুর আহমেদ'র মত্যুতে আশাশুনি আওয়ামীলীগের শোক জ্ঞাপন

আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি  সাতক্ষীরা  প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আহমেদ'র মত্যুতে আশাশুনি উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শোক জ্ঞাপন করেছেন। 

সোমবার ( ১ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা পৌণে সাত টায় ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মুনসুর আহমেদ (৭২) ইন্তিকাল করেন। (ইনালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজেউন)। মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে বিবৃতি দিয়েছেন, আশাশুনি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম, যুগ্ম সম্পাদক শ্রীউলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিল, সাংগঠনিক সম্পাদক সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সলিম রেজা মিলন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, আনুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন, প্রতাপনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক জগদীশ চদ্র সানা, উপজলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য মহিতুর রহমান, মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিনা আক্তার, শ্রমিকলীগ সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান বিপুল, ছাত্রলীগের সভাপতি আসমাউল হোসাইন প্রমুখ।

সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মনসুর আহমেদ আর নেই

সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মনসুর আহমেদ আর নেই

আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাবেক সংসদ সদস্য ও সাতক্ষীরা জেলা  আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মনসুর আহমেদ আর নেই?
তিনি সোমবার (১ ফেব্রুয়ারী) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। 
ইন্না-লিল্লাহি ওয়াইন্নাইলাহি রাজিউন। 

উল্লেখ্যঃ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে জানুয়ারি মাসের ১২ তারিখে হেলিকপ্টার যোগে ঢাকায় নেয়া হয়।

মুনসুর আহমেদ ১৯৯৬ ও ১৯৯১ এর সাবেক সংসদ সদস্য, সাবেক সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ প্রশাসক। ১৯৮০ থেকে ১৯৯৮ পর্যন্ত টানা ১৯ বছর তিনি সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭৫ পরবর্তী আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা রাখায় সেনা শাসকের নির্যাতনের মুখে ২২ মাস কারাভোগ করেন। ১৯৭৩ থেকে ১৯৮০ পর্যন্ত তিনি ইউপি চেয়ারম্যান ও রিলিফ কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।

মঙ্গবার বাদ জোহর জানাজা নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন সম্পন্ন করা হবে।

তেঁতুলিয়ায় Team Positive Bangladesh (TPB) এর শীতবস্ত্র বিতরণ

তেঁতুলিয়ায় Team Positive Bangladesh (TPB) এর শীতবস্ত্র বিতরণ

তেঁতুলিয়া প্রতিনিধিঃযখন তোমাদের উষ্ণ ওমে শীতের অভিলাষ ;ওদের তখন শীতার্ত শরীরে করুণ দীর্ঘশ্বাস!

মধ্যরাতে বাংলাদেশের সর্ব উত্তর এবং শীতলতম স্থান পঞ্চগড় তেঁতুলিয়ার বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে অসহায় শীতার্ত মানুষের জন্য Team Positive Bangladesh (TPB) এর পক্ষ থেকে 'দেশরত্ন শেখ হাসিনার ভালোবাসার উপহার' হিসেবে মানসম্মত কম্বল বিতরণ।
দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় বরাবরই শীতের প্রকোপ একটু দীর্ঘ হয়ে থাকে। গতবারের মতো এবারও প্রচণ্ড শীতের কারণে এখানকার খেটে খাওয়া নিম্ন আয়ের মানুষ মানবেতর জীবনযাপন করছে।সকাল থেকে দুপুর আবার দুপুরে থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নদীতে ভাসমান টিউবে চলে পাথর তোলার কাজ। এভাবেই চলে হাজারো পাথর শ্রমিকের জীবন-জীবিকা।

শীতবস্ত্র বিতরন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন Team Positive Bangladesh (TPB) ও সাবেক সাধারন সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এবং সাবেক ডাকসু জি,এস    গোলাম রাব্বানী,সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাসুদ করিম সিদ্দিকী,লিপ্টন, হেলাল,ও তেঁতুলিয়া সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ এর সাধারন সম্পাদক রকি।

গোলাম রাব্বানী বলেন বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেখেছি  দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়া তাই দেশরত্ন শেখ হাসিনার ভালোবাসার উপহার হিসেবে Team Positive Bangladesh (TPB)  শীতবস্ত্র বিতরন।

বগুড়ায় বিষাক্ত মদপানে পাঁচজনের মৃত্যু

বগুড়ায় বিষাক্ত মদপানে পাঁচজনের মৃত্যু

 মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃবগুড়ায় বিয়ের অনুষ্ঠান উপলক্ষে বিষাক্ত মদপানে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। রবিবার (৩১ জানুয়ারি) রাতে পুরান বগুড়ার ফুলবাড়ি ও কাটনারপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন শহরের পুরান বগুড়ার লোকমানের ছেলে রাজমিস্ত্রি রমজান আলী (৪০) ও প্রেমনাথের ছেলে সুমন (৩৮)।  শহরের কাটনারপাড়ার টোকাপট্টির কুলি শ্রমিক সাজু (৫৫) ও বাবুর্চি মোজাহার আলী (৭০)। এ ছাড়াও ফুলবাড়ি সরকার পাড়া এলাকার আব্দুল জলিল (৬৫)।

জানা গেছে, শহরের তিন মাথা এলাকায় ঋষি পরিবারের ছেলে চঞ্চলের বিয়ের অনুষ্ঠান ছিল রবিবার রাতে। সেই উপলক্ষে বিয়েবাড়িতে আগত লোকজন পার্শ্ববর্তী শাহীনের হোমিও দোকানে মদপান করে। রাতে বাড়ি ফিরলে সুমন তার বাবা প্রেমনাথ ও চাচা রামনাথ এবং প্রতিবেশী রমজান অসুস্থ হয়ে পড়েন। ভোররাতের দিকে তাদেরকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমনকে মৃত ঘোষণা করেন। মদপানে অসুস্থ দুই ভাই প্রেমনাথ ও রামনাথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ছাড়া রমজান স্থানীয় একটি ক্লিনিকে মারা যান।

অপরদিকে শহরের কালিতলা এলাকায় রবিবারে রাতে অ্যালকাহোল জাতীয় মদপান করেন সাজু, মোজাহার ও আব্দুল জলিল। রাতে বাড়ি ফিরলে অসুস্থ হয়ে তিনজনই মারা যান।বগুড়া পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তরুণ কুমার চক্রবর্তী বলেন, তিনজনই কালিতলা বাজার এলাকায় অতিরিক্ত অ্যালকাহোল পান করে অসুস্থ হয়ে বাড়িতেই মারা যান।

বগুড়া সদর থানার ওসি হুমাযুন কবীর বলেন, যারা মারা গেছেন প্রত্যেকের বাড়িতে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মৃত ব্যক্তিদের পরিবার থেকে বিষাক্ত মদপানে মারা যাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করা হয়েছে।


আসক নর্থনেঙ্গল জোনাল কমিটির পক্ষ থেকে নব-নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের অভিনন্দন জ্ঞাপন

আসক নর্থনেঙ্গল জোনাল কমিটির পক্ষ থেকে নব-নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের অভিনন্দন জ্ঞাপন

আব্দুল  আহাদ,নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃউত্তরবঙ্গে (নর্থবেঙ্গল) প্রতিটি পৌরসভা নির্বাচনে নব-নির্বাচিত সকল মেয়র ও কাউন্সিলরদের বিজয়ী শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন আসক নর্থবেঙ্গল জোনাল কমিটি। সোমবার বগুড়া জলেশ্বরীতলা শহীদ খোকন সড়কে অবস্থিত আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) নর্থবেঙ্গল জোনাল অফিসে পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে এক মুক্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত মুক্ত আলোচনা সভায় আসক কেন্দ্রীয় কমিটির কমিউনিকেশন ডিরেক্টর ও নর্থবেঙ্গল জোনাল কমিটির সভাপতি তৌহিদুৎ জামান লিখন নব-নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের বিজয়ী শুভেচ্ছা সহ অভিনন্দন বার্তায় বলেন, সাধারন জনগন যে আশা ও সপ্ন নিয়ে তাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে মেয়র ও কাউন্সিলর নির্বাচিত করেছেন, জনতার চেয়ারে বসে তাদের সেই সপ্ন তারা পুরণ করবে এবং প্রতিটি পৌরসভাকে ডিজিটাল পৌরসভা হিসাবে গড়ে তুলবে সর্বোপরি প্রতিটি নাগরিকের মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা করবে এই আশাবাদ ব্যাক্ত করেন। উক্ত মুক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, আসক নর্থবেঙ্গল জোনাল কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি আ স ম ওয়াসিম বিল্লাহ, সহ-সভাপতি আরেফুল রহমান বাদশা, মতিয়ুর রহমান মানিক, জাবেদ মন্ডল , মহসিন আলম, এস এম তুহিন , মোঃ মজনু আহমেদ ,যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক মাহবুব সাঈদী, এম এ আহসান কবির, তানসেন আলম, জাহিদ হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক এম এ রশিদ মামুন, আবু সাঈদ, দপ্তর সম্পাদক আরিফুর রহমান,   প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম জুয়েল, অর্থ ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ শাহ্ নেওয়াজ, উপ-প্রচার ও প্রকাষনা বিষয়ক সম্পাদক হাসানুজ্জামান, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আরিফুজ্জামান, মহীলা ও শিশু বিষয়ক সম্পাদিকা মোছাঃ শামীমা আক্তার জলি, মোছাঃ নাফিসা ইয়াসমিন, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সাখাওয়াৎ হোসেন, শিক্ষা ও সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক সজিব উদ্দিন সরকার, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট ফাহিম শাহরিয়ার, এডভোকেট মাহমুদুর রহমান, এডভোকেট মামুন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক রমিজুল করিম, সাংস্কৃতির বিষয়ক সম্পাদক নিয়াজ মোর্শেদ, সাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক মাকছুদ আলম, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান, শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক আলমগীর হোসেন, ত্রান ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক আল মামুন ইসলাম, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সহ কার্যনির্বাহী সদস্যবৃন্দ।

সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি'র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের শোক জ্ঞাপন

সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি'র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের শোক জ্ঞাপন

আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক জেলা পরিষদ প্রশাসক, প্রবীন রাজনীতিবিদ আলহাজ্ব  মুনসুর আহমেদ আর নেই।তিনি সাতক্ষীরাসহ দেশবাসিকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে, রাজধানী ঢাকার স্পেশালাইজড হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত  পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে বিবৃতি দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মোঃ জহির উদ্দিন মবু কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এড.আল মাহমুদ পলাশমহ সাতক্ষীরা জেলা শাখা, সকল উপজেলা শাখা, পৌর শাখা, সকল ইউনিয়ন শাখা সকল ওয়ার্ড শাখাসমূহের সকল নেতাকর্মীবৃন্দ।

শোক জ্ঞাপন করে সকল বিবৃতিদাতারা বলেন, প্রবীন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব মুনসুর আহমেদের মৃত্যুতে সাতক্ষীরাবাসী একজন প্রবীন রাজনীতিবিদ এবং দক্ষ অভিভাবককে হারালো। তাকে হারানোর মধ্যে যে ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে, সে ক্ষত কোন ভাবেই পূরণ হওয়ার নয়?

সাতক্ষীরাবাসী সাবেক সাংসদ, বীরমুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আহমেদকে আজীবন শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে।

পটিয়ায় কাউন্সিলর প্রার্থী রূপক সেনের গণসংয়োগ

পটিয়ায় কাউন্সিলর প্রার্থী রূপক সেনের গণসংয়োগ

সেলিম চৌধুরী স্টাফ রিপোর্টারঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভার নির্বাচন ১৪ ফেব্রুয়ারী। এ-ই নির্বাচনে পটিয়া পৌরসভার ৪ বারের জনপ্রিয় কাউন্সিলর ও বর্তমান কাউন্সিলর প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার রূপক কুমার সেন বলেছেন, পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডকে আগামীতে মডেল ওয়ার্ড বানানো হবে। বিগত ২৩ বছরে তিনি রাস্তা-ঘাট উন্নয়নের পাশাপাশি ব্যাপক উন্নয়ন কাজ করেছেন। তার ধারাবাহিকতায় আগামীতেও উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রাখা হবে। আজ ১ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) বেলা ২টার পর থেকে ২নং ওয়ার্ড সুচক্রদন্ডী খাস্তগীরপাড়া, মিলন মন্দির এলাকায়, সাহিত্য বিশারদ এলাকা, ইন্দ্রপুল ও পল্লী মঙ্গল এলাকায় গণসংযোগ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগ  নেতা জুলহাজুর রহমান লিংকন।আওয়ামী লীগ নেতা  মোঃ জাহাঙ্গীর সওদাগর। আওয়ামী লীগ নেতা  রনা দে, তপন,খোকন মল্লিক, মোঃ শফিকুল ইসলাম শফি  জাতীয় শ্রমিক লীগ পটিয়া পৌরসভা শাখা। মোঃ নাজিম উদ্দীন উপ প্রাচার ও প্রাকাশনা সম্পাদক  পটিয়া  পৌরসভার আওয়ামী লীগ,  আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ মন্জু ভান্ডারী,মোঃ জহিরুল ইসলাম  কালু সেন, মোঃ সেলিম মোল্লা, সাধন দে  যুব লীগ নেতা  মোঃ আরিফ, পটিয়া পৌরসভা ২ নং ওয়ার্ড জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি বাবু শিব রাম দে সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাইফুল ইসলাম বিপু  নয়ন দে, রাজু দে, মোঃ রফিক,  নুরুল ইসলাম  গুরা, মোঃ মোরশেদ, ছাত্র লীগ নেতা মোঃ জসিম, মোঃ কায়েস, মোঃ  সাকিব, মানিক, 

বাবু,, তৌহিদ প্রমুখ। এছাড়াও কাউন্সিলর প্রার্থী রুপক সেনের সাথে এলাকার শত শত নারী- পুরুষ গনসংযোগ অংশ গ্রহণ করে এবং ফুলের শুভেচ্ছা  জানিয়ে  সংবর্ধিত  করেন। 

চরফ্যাশনে চেয়ারম্যানের ভাই ও ভাতিজা পা ভেঙ্গে দিলো দোকানীর

চরফ্যাশনে চেয়ারম্যানের ভাই ও ভাতিজা পা ভেঙ্গে দিলো দোকানীর

ভোলা প্রতিনিধিঃ ভোলার চরফ্যশনে চেয়ারম্যানের ভাই ও ভাতিজা মিলে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে।এতে মুদি দোকানিসহ দুই জন গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।
শুক্রবার (২৯জানুয়ারি) রাতে চরফ্যাশন উপজেলার নজরুল নগর ইউনিয়নের দূর্গম অঞ্চল চর নলুয়া স্লুইসগেট বাজার এলাকায় মারধরের এ ঘটনা ঘটে।
উপজেলার নজরুল নগর ইউনিয়ন ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ইব্রাহীম হাওলাদার (৫০) ও তার ছেলে সাইফুল হাওলাদার (২৩) স্লুইসগেট বাজারে তাদের হাওলাদার স্টোর নামের মুদি দোকানে সন্ধ্যায় বেচাকেনার সময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন হাওলাদারের ভাই রিয়াদ,মাকসুদ ভাতিজা ইমনসহ আরও ৫/৬জন মিলে দোকানী ইব্রাহিম ও তার ছেলে সাইফুল হাওলাদারকে হকিস্টিক, লাঠি ও লোহার রড দিয়ে মারধর করে গুরুতর জখম করে বলে আহতের পরিবার অভিযোগ করেন।
চিকিৎসাধীন ইব্রাহীম হাওলাদার অভিযোগ করে বলেন, রুহুল চেয়ারম্যানের দুই ভাই এবং ভাতিজা প্রায় ৫০ থেকে ৭০ টি ছাগল পালন করে। এসব ছাগল বাজারে ও রাস্তাঘাটে ছেড়ে দিয়ে পালন করায় স্লুইসগেট বাজারে মানুষের দোকানপাট ও বাসা বাড়িতে গিয়ে গাছগাছালিসহ মুদি দোকান ও কাঁচা বাজারের দোকানে গিয়ে খাবার খেয়ে স্থানীয় জনসাধারণের ক্ষতি করে।
সাইফুল হাওলাদার অভিযোগ করে বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যার আগে চেয়ারম্যানদের ছাগল এসে দোকানের খাবারে মুখ দিলে আমি তাড়িয়ে দেয়ায় চেয়ারম্যানের ভাই রিয়াদ, মাকসুদ ও তার ভাই বাবুল হাওলাদারের ছেলে ইমনসহ ৫ থেকে ৬জন মিলে সন্ধ্যায় আমাদের দোকানে এসে হামলা করে। এসময় আমাকে ও আমার বাবা ইব্রাহিম হাওলাদারকে দাঁ সেনি ও লোহার রড লাঠিসোঁটা এবং হকিস্টিক দিয়ে পিটিয়ে এবং কুপিয়ে আমাদের আহত করে। এসময় আমার চোখে, মাথায় এবং ডান পায়ে রড ও দায়ের কোপসহ লাঠির আঘাতে গুরুতর জখম হয়। এছাড়াও আমার বাবার বাম পায়ের গোড়ালি রড ও লাঠির আঘাতে ভেঙ্গে যায়।
চেয়ারম্যানের প্রভাবে তার ভাই ও ভাতিজারা দূর্গম ওই এলাকায় একাধীক অপকর্মসহ ত্রাস সৃষ্টি করারো অভিযোগ করেন স্থানীয় একাধিক এলাকাবাসী।
এ অভিযোগ বিষয়ে জানতে রিয়াদকে একাধিকবার ফোন দিয়েও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
তবে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন হাওলাদার তার ভাই ও ভাতিজা কর্তৃক মারধরের ঘটনা স্বীকার করে বলেন, উভয় পক্ষই মারামারির সাথে সম্পৃক্ত কিন্তু এক পক্ষ মার বেশি খেয়েছে। আহতদের দেখতে আমার ভাই ও ভাতিজা হাসপাতালে গিয়েছে। তাদের ডেকেছি তারা যদি আসে তাহলে স্থানীয়ভাবে বিষয়টির সুষ্ঠু সালিশ ফয়সালা করে দেয়া হবে।
দক্ষিণ আইচা থানার অফিসার ইনচার্জ হারুন অর রশিদ বলেন, এবিষয়ে অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শৈলকুপায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত- ১

শৈলকুপায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত- ১

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃশৈলকুপা উপজেলার ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহাসড়কের বড়দাহ মাদ্রাসা নামক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় আরিফ শেখ (৬৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তি শৈলকুপা উপজেলার ২ নং মির্জাপুর ইউনিয়নের রানীনগর গ্রামের বাসিন্দা। চড়িয়ারবিল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দপ্তারির কাজ করেন। স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, তিনি আজ সকাল ৮ টার সময় রাস্তা পার হচ্ছিলেন এমন সময় শ্যামলী পরিবহন একটি গাড়ি এসে তাকে ধাক্কা দিয়ে চলে যায় এবং তিনি ঘটনাস্থলে নিহত হন।

ঘটনাটির সত্যতা শৈলকুপা থানা অফিসার ইনচার্জ নিশ্চিত করেছেন।