শ্রীউলায় আবারো প্রচন্ড গতিতে পানি ভিতরে ঢুকছে

শ্রীউলায় আবারো প্রচন্ড গতিতে পানি ভিতরে ঢুকছে





আহসান উল্লাহ বাবলু সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নে ভেড়ী বাঁধ ভাঙ্গা পানি ভিতরে আবারও প্রচন্ড গতিতে ভিতরে ঢুকছে। দীর্ঘ ৪ মাসেও বাঁধ ও রিং বাঁধ নির্মান করে এলাকাকে রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। 


২০ মে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তান্ডবে ও ২০ আগস্ট নদীর জোয়ারের পানি অস্বাভাবিক ভাবে উচু হয়ে তীব্র ¯্রােতে এলাকার বেড়ী বাঁধ ও রিং বাঁধ ভেঙ্গে এলাকা প্লাবিত হয়। ইউনিয়নের সকল গ্রাম এখন নদীর পানিতে ডুবে আছে। এসব মানুষদের বড় অংশকে আপাতত রক্ষার উদ্দেশ্য মাথায় নিয়ে রিং বাঁধের কাজ করা হয়। কিন্তু জোয়ারের পানির চাপে রিং বাঁধেরও শেষ রক্ষা হয়নি। ফলে সকল গ্রাম প্লাবিত হয়ে আশাশুনি সদরের কয়েকটি গ্রামও প্লাবিত হয়ে যায়। চলতি আমাবশ্যা  গোনে নদীর পানি ও ¯্রােত বেড়ে যাওয়ায় ইউনিয়নের ভিতরে পানি ব্যাপক ভাবে ঢুকে যাচ্ছে। এতে রাস্তাঘাট, ঘরবাড়িসহ সকল স্থানে নতুন করে পানি বৃদ্ধি ঘটছে। মানুষের দুর্গতি আবারো বহুগুণে বেড়ে যাচ্ছে। এসব স্থানে রিং বাঁধ রক্ষার্থে ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিলের নেতৃত্বে এলাকার মানুষ কাজ করে যাচ্ছে।

উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি এর জন্মদিনে মোংলার বিভিন্ন মাদ্রাসা এতিমখানায় দোয়া অনুষ্ঠান

 উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি এর জন্মদিনে মোংলার বিভিন্ন মাদ্রাসা এতিমখানায় দোয়া অনুষ্ঠান



মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা       


পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়ের মাননীয়  উপ মন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহারের জন্মদিন উপলক্ষে মোংলার বিভিন্ন মাদ্রাসা ও এতিমখানায় খাবার বিতরণ ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। 



শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) মাগরিবের নামাজের পর সিগনাল টাওয়ার জরিনা কুলসুম এতিমখানা ও মাদ্রাসা, নেছারিয়া খানকা শরীফ, চালনা বন্দর সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা হেফজ খানা, বহুমূখী মাদ্রাসার হেফজ খানা, বাইজিদ বোস্তামী জামে মসজিদে উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহারের দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য  কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত শেষে খাবার বিতরণ করা হয়।


মোংলা পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিমের পক্ষ থেকে এ দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।


এসময় উপস্থিত ছিলেন শেখ আব্দুল হাই ব্লাড ফাউন্ডেশনের সভাপতি রাজুল ইসলাম সানি, সিনিয়র সহ সভাপতি কাজী মোঃ সাগর, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুম বিল্লাহ,মোংলা যুব ফোরামের সভাপতি মোঃ পারভেজ খাঁন, মোংলা সাহিত্য পরিষদের আহ্বায়ক মনির হোসেন, নিশারুল ইসলাম সবুজ ও মোঃ শুক্কুর আলী প্রমূখ।

মাধবপুরে এনা বাসের ধাক্কায় বৃদ্ধা নিহত

 মাধবপুরে এনা বাসের ধাক্কায় বৃদ্ধা নিহত



লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃহবিগঞ্জের মাধবপুরে এনা পরিবহনের দ্রুতগামী একটি বাসের ধাক্কায় মালেকা বেগম (৬৫) নামে এক নারী ঘটনাস্থলেই মারা গেছে। নিহত মালেকা বেগম মাধবপুর উপজেলার ছাতিয়াইন ইউনিয়নের এক্তিয়ারপুর গ্রামের সিরাজ আলীর স্ত্রী। মাধবপুর থানার এসআই ইসমাইল হোসেন জানান ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে মাধবপুর উপজেলার


শাহপুর-এক্তিয়ারপুর রাস্তার মাথায় শুক্রবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। বৃদ্ধা মালেকা বেগম রাস্তা পারাপারের সময় সিলেট থেকে ঢাকাগামী এনা পরিবহনের একটি বাস দ্রুতগতিতে যাওয়ার সময় তাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মালেকা বেগমের মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনার পর বিক্ষুদ্ধ জনতা মহাসড়কে ব্যারিকেড দেয় এতে প্রায় এক ঘন্টা।


ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে। এ সময় রাস্তার দুপাশে কয়েকশত গাড়ী আটকা পড়ে। খবর পেয়ে মাধবপুর থানা ও শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়। শায়েস্তগঞ্জ হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ তৌফিকুল ইসলাম এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

'বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা' আনোয়ারা উপজেলা শাখার পক্ষ থেকে প্রয়াত আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান চৌধুরী বাবু'র কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ

 'বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা' আনোয়ারা উপজেলা শাখার পক্ষ থেকে প্রয়াত আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান  চৌধুরী বাবু'র কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ



মোঃ আরিফুল ইসলাম,চট্টগ্রাম,প্রতিনিধিঃ আনোয়ারা উপজেলা তথা সমগ্র চট্টগ্রামের জননন্দিত নেতা সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান চৌধুরী বাবু'র কবরে পুষ্পস্তবক সহিত শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করে নবগঠিত "বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা" আনোয়ারা উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ।এ সময় উপস্হিত ছিলেন অত্র সংগঠনের সভাপতি শওকত আলী(ভারপ্রাপ্ত),সহ সভাপতি যথাক্রমে মোঃ ওয়াসিম(মাষ্টার),মোঃ আবসার উদ্দিন,মোঃ তারেক হোসেন লিটন,মোঃ ইলিয়াস আজাদ(রুবেল),মোঃ গিয়াসউদ্দিন চৌধুরী,জুয়েল দেবনাথ,মোঃ আনিসুর রহমান,মোঃ ইশতিয়াক উল হক(রিমন),মোঃ শওকত,মোঃ শরীফ সিদ্দিকী,মোঃ আব্দুল ফরহান(পিয়াল),রাহুল চক্রবর্তী। সাধারণ সম্পাদক দীপু দত্ত(ভারপ্রাপ্ত), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে ওবায়েদুল কাদের(সুজাত),দিদারুল ইসলাম(পাভেল),মোঃ গিয়াস উদ্দিন,আরিফ খান জয়,মোঃ আলাউদ্দিন,মোঃআব্বাস,এরশাদুল ইসলাম,শাবলু মিত্র,জয়নুল আবেদীন(সুজন),ইউসুফ বিন মনির,পলাশ দত্ত। সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ইয়াছিন মাসুদ,সহ সাংগঠনিক সম্পাদক অংকন বল,জয়নাল আবেদীন সাগর,পার্থ সিংহ,মোঃ কাইছার,নিউটন দত্ত। দপ্তর সম্পাদক ফারুক ইসলাম,সহ দপ্তর সম্পাদক জহিরুল আলম(বরিয়া),চন্দন দত্ত। প্রচার সম্পাদক শোয়াইব আহমেদ,সহ প্রচার সম্পাদক মোঃ তাজউদ্দীন,অন্তু দত্ত। আইন বিষয়ক সম্পাদক নারায়ণ শীল,সহ আইন বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মেহেরাজ।  প্রকাশনা সম্পাদক শান্তনু ভট্টাচার্য,সহ প্রকাশনা সম্পাদক নিজাম শেওয়ানা। বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ গিয়াস উদ্দিন,সহ বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউল হাছান। আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক কাজী মোঃ মোকতার,সহ আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম(তারেক)। ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সেলিম রিয়াদ ,সহ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক রনি দত্ত। শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক মোঃ হালিম, সহ শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক দিবস দে। ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক সজীব দত্ত, সহ ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মোঃ নাঈম উদ্দিন। অর্থ সম্পাদক মোঃ মাহবুবুর আলম, সহ অর্থ সম্পাদক যথাক্রমে লিটন ভট্টাচার্য,মোঃ সোহেল(গুন্দীন),মোঃ তৌহিদ,মোঃ মিনহাজ্ব,সাহেদুল ইসলাম(সাকিব),মোঃ ফরহাদ খাঁন,মোঃ মিনহাজুল ইসলাম(রুবেল), সদস্য যথাক্রমে রুপেশ দাশ(সৃজন),মারুফুল ইসলাম,মোঃ হানিফ,রমিজ উদ্দিন চৌধুরী,মোঃ রফিকউল্লাহ প্রমুখ।

ফলোআপঃ আশাশুনি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষের অবসর ও দায়িত্ব নেওয়া, এলাকায় তোলপাড়!

ফলোআপঃ আশাশুনি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষের অবসর ও দায়িত্ব নেওয়া, এলাকায় তোলপাড়!


আহসান উল্লাহ বাবলু, সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি   ঃ আশাশুনি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সাইদুল ইসলাম চাকুরীর বয়সসীমা শেষ হলেও কলেজের দায়িত্ব পালন করার বিষয়টি বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ায় এলাকায় ব্যাপক গুঞ্জন শুরু হয়েছে। অধ্যক্ষের দায়িত্ব থেকে অবসর ও পুনরায় দায়িত্ব নেওয়ার ঘটনা নিয়ে নানা প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। এমনকি নিজের মনপুত কাউকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ করার ঘটনা ঘটতে পারে এমন ইঙ্গিতের বিচ্ছুরণ লক্ষিত হচ্ছে। 


বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবলকাঠামো ও এমপিও নীতিমালা- ২০১৮ এ উল্লেখ আছে, “---বয়স ৬০ বছর পূর্ণ হবার পর কোন প্রতিষ্ঠান প্রধান/সহঃ প্রধান/শিক্ষক-কমচারীকে কোনো অবস্থাতেই পুনঃ নিয়োগ কিংবা চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেওয়া যাবেনা।” শিক্ষা মন্ত্রণালয় ০৬/০৬/২০১১ তাং পরিপত্র ও ০৯/০৭/২০১২ তাং সংশোধনী মোতাবেক দেখা যায় প্রতিষ্ঠান প্রধান (অধ্যক্ষ/প্রধান শিক্ষক) না থাকলে সহকারী প্রধান/উপাধ্যক্ষ দায়িত্ব পালন করবেন, তিনি না থাকলে জ্যেষ্ঠতম সহকারী শিক্ষক/ জ্যেষ্ঠ সহকারী অধ্যাপক দায়িত্ব পালন করবেন। কিন্তু আশাশুনি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ০১/০৯/২০২০ তাং ৬০ বছর পূর্ণ হলেও দায়িত্ব হস্তান্তর না করে এমপিও নীতিমালা ও কাঠামো-২০১৮ অবমাননা করে গভনির্ূং বডির অনুমোদনের কথা বলে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসাবে বহাল তবিয়তে দায়িত্ব পালন করছেন। এনিয়ে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ এবং ব্যাপক আলোচনা ও সামালোচনা মুখে কলেজের ৩য় স্থানে থাকা জ্যেষ্ঠতম শিক্ষককে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট পরিসরে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। জানাগেছে অবঃ অধ্যক্ষ মোঃ সাইদুল ইসলাম ২৫০৪(৩)/১ তাং ০৭/১০/২০১৮ নাশকতা মামলার আসামী এবং যাকে দায়িত্ব দেওয়ার গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে মোঃ শহিদুল ইসলাম একই মামলার আসামী। জ্যেষ্ঠতম শিক্ষকদের দায়িত্ব না দিয়ে ৩য় তম জ্যেষ্ঠ শিক্ষককে দায়িত্ব দেওয়া হলে সেটি হবে চরম অনিয়ম এমন অভিযোগ এনে সংশ্লিষ্ট সূত্রে অভিযোগ করা হয়েছে, কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য করা হয়েছে, অধ্যক্ষ সাইদুল ইসলামের বড় ভাই নূরুল ইসলাম বাবলু, ছোট ভাই মফিজুল ইসলাম, ভাগ্নে হত্যা মামলার আসামি প্রভাষক আকবর ও আপন ভাগ্নে জামাই আঃ রবকে। এহেন স্বজনপ্রীতি ও পারিবারিকরণের অভিযোগ এনে সূত্র সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ হতবাক হয়ে পড়েছে। কলেজের অধ্যক্ষ সাইদুল ইসলাম অবশ্য জানিয়েছেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় আমাকে গণিত শিক্ষক হিসাবে এক বছরের পাঠ দানের অনুমতি দিয়েছে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজুলেশন ও চাকুরী বিধি অনুযায়ী গভর্নিং বডি সিনিঃ শিক্ষক হিসাবে আমাকে এক বছরের জন্য ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব অনুমোদন করেছেন। কোন অনিয়ম করা হয়নি। 


আশাশুনির মিত্র তেঁতুলিয়া স্কুলের সভাপতি হলেন তৃষ্ণা দত্ত

আশাশুনির মিত্র তেঁতুলিয়া স্কুলের সভাপতি হলেন তৃষ্ণা দত্ত





আহসান উল্লাহ বাবলু সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি ইউনিয়নের মিত্র তেঁতুলিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন তৃষ্ণা দত্ত। শুক্রবার সকালে বিদ্যালয় হলরুমে এসএমসির সভাপতি নির্বাচন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গহর সরদারের সভাপতিত্বে এসময় কাদাকাটি ইউপি চেয়ারম্যান দিপংকর কুমার সরকার, সাবেক সভাপতি আব্দুর রউফ সরদার, বীরমুক্তিযোদ্ধা সায়েদ ফকির, ইউপি সদস্য শাহ গোলাম মোস্তফা, সমাজসেবক আলহাজ্ব রফিকুল সরদারসহ শিক্ষকবৃন্দ, ম্যানেজিং কমিটির সকল সদস্যবৃন্দ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। সভায় এসএমসি সভাপতি পদে দুইজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দীতা করার আগ্রহ প্রকাশ করায় উপস্থিত সদস্যবৃন্দের সর্বসম্মতিক্রমে উক্ত পদে গোপন ব্যালটের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ১১ জন ভোটারের মধ্যে মিত্র তেঁতুলিয়া গ্রামের সুশান্ত মিত্র বাপনের স্ত্রী তৃষ্ণা দত্ত ৫ ভোট পেয়ে সভাপতি নির্বাচিত হন। অপর প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী তেঁতুলিয়া গ্রামের প্রভাষক কান্তিলাল বিশ্বাস ৪ ভোট পান এবং ২জন সদস্য ভোট দানে বিরত ছিলেন।

মোংলা সরকারি কলেজে উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের জন্মদিন পালন

 মোংলা সরকারি কলেজে উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের জন্মদিন পালন


মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা   

পরিবেশ, বন ও জলাবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বাগেরহাট-৩ মোংলা-রামপাল আসনের সংসদ সদস্য বেগম হাবিবুন নাহারথর জন্মদিন উপলক্ষে মোংলা সরকারি কলেজের আয়োজনে কলেজ মিলনায়তনে ১৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকেলে কেককাটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।


শুক্রবার বিকেল ৩টায় কেককাটা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মোংলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ গোলাম সরোয়ার। সবার অনুরোধে কেককাটা অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সথর মাধ্যমে ঢাকা থেকে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার ও কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ সুনীল কুমার বিশ্বাস। কেককাটা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রভাষক মোঃ আনোয়ার হোসেন, প্রভাষক কুবের চন্দ্র মন্ডল, প্রভাষক শ্যামা প্রসাদ সেন, ড. অসিত বসু, ড. অপর্ণা অধিকারী, প্রভাষক প্রদীপ অধিকারী, প্রভাষক সাহারা বেগম, প্রভাষক মমতাজ বেগম প্রমূখ। জন্মদিনের অনুষ্ঠান সঞ্চলনায় ছিলেন প্রভাষক মাহবুবুর রহমান ও প্রভাষক মনোজ কান্তি বিশ্বাস। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি বলেন জীবন মানুষের সবচেয়ে প্রিয় সম্পদ । তাই এমন ভাবে বাঁচতে হবে যাতে মৃত্যুর মুহুর্তে মানুষ বলতে পারে আমার সমগ্র জীবন আমার সমগ্র শক্তি আমি ব্যয় করেছি এই দুনিয়ার সবচেয়ে বড় আদর্শের জন্য, মানুষের মুক্তির সংগ্রামে ও সেবায়।

পটিয়া পৌর ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের ১৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনে- মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ

 পটিয়া পৌর ও উপজেলা  মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের ১৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনে- মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ


সেলিম চৌধুরী পটিয়া প্রতিনিধিঃ  বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্বা প্রজন্মলীগ পটিয়া উপজেলা ও পৌরসভার আয়োজনে সংগঠনের ১৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী দোয়া মাহফিলের মধ্যে দিয়ে  পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে ১৮ সেপ্টেম্বর  শুক্কুরবার  এক দোয়া মাহফিল পটিয়া আদালত জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে বাদে আসর পটিয়া পৌরসভার আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ সভাপতি শফিকুল ইসলাম শফির সভাপতিত্বে  এবং উপজেলা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ সভাপতি সৈয়দ মুহাম্মদ মহিউদ্দিন সাগর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন পটিয়া পৌরসভার আওয়ামীলীগের সভাপতি আলমগীর আলম, বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক পৌর আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব বাবুল।। উপস্থিত ছিলেন মুক্তি যোদ্ধা আহমদ ছফা মেম্বার,  আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা     মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ পটিয়া পৌরসভার   সাধারণ সম্পাদক,জয়নেল আবেদীন, পটিয়া উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইদ্রিস, সাবেক ছাএনেতা মাসুদ রানা, পটিয়া পৌরসভার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাওছার আলম,মিনহাজুর রহমান বশর, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিপু, মীর সাদ্দাম, মাহবুল আলম,জহিরুল ইসলাম, রফিক উদ্দীন, শিবু রাম দে, শুভ দাশ,উপজেলা নেতা আরিফ, বিজয় ভট্রচার্য্য শান্তু,, মোঃ এমরান, এম মজিদ চৌধুরী, আবুল কালাম,নুরুল ইসলাম বাবু, মোঃ তানিম,  মোঃ সাকিব, মনির, আবদুল আলম রানা,রুবেল, রানা শীল,জাবেদুল ইসলাম জিসান,আরিফ, মিজানুর রশিদ,আঁকিব প্রমুখ। সভায় প্রধান অতিথি পৌর মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় সারাদশ  ব্যাপক উন্নয়ন কাজত্বরান্বিত হয়েছে। এর ধারাবাহিকতা পটিয়া উপজেলা পৌরসভায় জাতীয় সংসদের হুইপ পটিয়ার এমপি আলহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরী নেতৃত্বে হাজার হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন হয়েছে। আগামীতে এর ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে পটিয়া পৌর জনগণের প্রতি আহবান জানান। 

ভর্তির সুযোগ পেয়েও অনিশ্চয়তায় দুই বোন!

ভর্তির সুযোগ পেয়েও অনিশ্চয়তায় দুই বোন!




নারায়ণগঞ্জ, শিপনঃনারায়ণগঞ্জের সরকারি তোলারাম কলেজে ভর্তির সুযোগ পেলেও টাকার অভাবে ভর্তি অনিশ্চিত দুই বোন হাবিবা ও সুমাইয়ার

। হাবিবা ও সুমাইয়া সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি আব্দুল আলীপুল এলাকায় নানাবাড়িতে থাকে। বাবা দ্বিতীয় বিয়ে নেয় না তাই খোজ। মা আসমা বেগম ১০ হাজার টাকা বেতনের আদমজী ইপিজেডের কর্মি।

মিজমিজি পশ্চিমপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে হাবিবা জিপিএ- ৪.৫২ ও সুমাইয়া জিপিএ- ৪.৭১ পেয়ে এবার এসএসসি পাস করেছে। অনলাইনে আবেদন করে সরকারি তোলারাম কলেজে ভর্তির জন্য সুজোগ হয় তাদের। গত রোববার থেকে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হলেও ৫ হাজার টাকার জন্য তারা দুই বোন এখন পর্যন্ত ভর্তি হতে পারেনি।

হাবিবা আক্তার জানায়, তারা ৬ বোন। ৪ বছর আগে বড় বোনের বিয়ে হয়। বাকি ৩ বোনের মধ্যে দুইজন পঞ্চম শ্রেণিতে ও আরেকজন শিশু শ্রেণিতে পড়ে।

মা আছমা বেগম টানাপোড়েনের মধ্যে থেকেও সংসার চালাচ্ছেন। হাবিবা ও সুমাইয়ার মামারা গার্মন্টসে চাকরি করে, নিজেদের সংসারের খরচে হিমশিম খান। সেজন্য চাইলেও তারা সহযোগিতা করতে পারেন না।

হাবিবা   যানান আমাদের কোনো ভাই নেই বলে বাবা আমার মাকে অনেক নির্যাতন করতেন। ২০১৭ সালে আমার মায়ের অনুমতি ছাড়া আরেকটি বিয়ে করার পর সংসারে কোনো খরচ না দেয়ায় আমি দেড় বছর গার্মেন্টসে চাকরি করে সংসারের খরচ বহন করি। এজন্য আমি স্কুলে কোনো ক্লাসও করতে পারিনি। তারপর আমার মা চাকরি পেলে আমি চাকরি ছেড়ে আবারও লেখাপড়ায় মন দিই, আমরা লেখাপড়াটা করতে চাই। আমরা সবাইকে দেখিয়ে দিতে চাই।


 সুমাইয়া বলে, ‘আমরা লেখাপড়া করে ভালো একটা চাকরি করতে চাই। সমাজে আমাদের মতো যারা বঞ্চিত তাদের জন্য ভবিষ্যতে কিছু করতে চাই। তাছাড়া আগামী জানুয়ারি থেকে টিউশনি করার চেষ্টা করব।

মা আছমা বেগম বলেন, আমি চাই আমার মেয়েরা লেখাপড়া করুক। আমার মেয়েদের লেখাপড়ার আগ্রহ আছে।

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন



এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফ:হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফী আর নেই। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন। শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন।


এর আগে শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টায় হেফাজত ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর শারীরিক অবস্থা অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকায় আনা হয়েছিল। এরপরই তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।


চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের আইসিইউতে থাকা আল্লামা শফীকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে শুক্রবার সন্ধ্যার আগে ঢাকায় এনে আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।


উল্লেখ্য, প্রায় শতবর্ষী আল্লামা আহমদ শফী দীর্ঘদিন যাবত বার্ধক্যজনিত দুর্বলতার পাশাপাশি ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন।

বীরগঞ্জ উপজেলার কেডিএস মোড় থেকে অর্জনারহাট বাজারের রাস্তা বেহাল দশা

বীরগঞ্জ উপজেলার কেডিএস মোড় থেকে অর্জনারহাট বাজারের রাস্তা বেহাল দশা





খাদেমুল ইসলাম রাজ 

বীরগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধিঃ


বীরগঞ্জ উপজেলা ৩নং শতগ্রাম ইউনিয়নের অনেক গুলো কাঁচা রাস্তার মধ্যে কেডিএস মোড় হতে অর্জুনারহাট বাজার পর্যন্ত বেহাল দশা রাস্তাটি।



সংস্কারের অভাবে বেহাল দশা বর্তমান রাস্তাটি এলাকাবাসীর গলার কাঁটায় পরিণত হয়েছে। রাস্তাটি স্থানীয় ভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। রাস্তাটির মাঝখানে  খড়িকাদাম  সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় অবস্হিত।এ রাস্তা দিয়ে ছাত্র ছাত্রীদের  ঝাড়বাড়ী কলেজ যেতে হয় এবং বানিজ্যিক হাট হিসেবে পরিচিত, ঝাড়বাড়ী হাট যেতে হাজার হাজার মানুষকে এই রাস্তা ব্যবহার করতে হয়। দুঃখ জনক হলেও সত্যি যে এতে জনগুরত্বপূর্ণ হওয়ার সত্বেও রাস্তাটি এখনো কাঁচা। রাস্তা পাকা করার জন্য স্থানীয় জনগন জনপ্রতিনিধির সরকারের কাছে আবেদন করেছে।  


কিন্তু কাঁচা রাস্তাটি স্বাধীনতার ৪৮বছরেও কোন জনপ্রতিনিধির চোখে পড়ে নাই। বর্তমান বর্ষাকালে কেডিএস মোড় হতে অর্জুনাহার বাজার পর্যন্ত,রাস্তাটি কাঁচা হওয়ায় স্থানীয় জনগণকে  চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এই ভোগান্তি ইতি টানা দরকার। 


বেহাল রাস্তাটি অবিলম্বে সংস্কারের দাবি তুলেছেন স্থানীয় মানুষজন। দিনাজপুর- ১(বীরগঞ্জ,কাহারোল)আসনের সংসদ সদস্য, মাননীয় এমপি মহোদয় জনাব মনোরঞ্জন শীল গোপাল দাদার কাছে বিনীত নিবেদন এই যে উক্ত রাস্তাটুকু পাকা করন করলে অত্র এলাকার জনগনের উপকার হয়।

সিরাজগঞ্জে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণে- এমপি মুন্না

সিরাজগঞ্জে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির পক্ষ  থেকে  খাদ্য  সামগ্রী  বিতরণে- এমপি মুন্না



মাসুদ রানা

সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ


বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা এখন আর কেবল স্বপ্ন নয়। এখন তা এক বিমূর্ত সত্য। সব বাংলাদেশিরই আজ একই অনুভূতি মন্তব্য করে সিরাজগঞ্জ-২ (সদর-কামারখন্দ) আসনের এমপি ও বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি’র ভাইস চেয়ারম্যান ও আই এফ আর সি এর গভর্নিং বডির মেম্বার অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না   বলেছেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন পূরণে আমরা অনেক দূর এগিয়ে গেছি।বঙ্গবন্ধুর অসময়ে প্রস্থান আমাদের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকেই ব্যাহত করেনি, বরং আমাদের রাজনৈতিক অঙ্গনেও নেতৃত্বের শূন্যতা সৃষ্টি করেছিল। তবে বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ তার সঠিক পথ খুঁজে পেয়েছে।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারা দেশে বিভিন্ন খাতে ব্যাপক উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে   তিনি  আরও বলেন,দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষকে শিকড়চ্যুত না করে ঘরের কাছেই কর্মের সুবিধা সৃষ্টিতে সরকারের নেওয়া পদক্ষেপের অংশ হিসেবে সিরাজগঞ্জের সয়দাবাদে গড়ে উঠছে বেসরকারি পর্যায়ে দেশের বৃহৎ অর্থনৈতিক অঞ্চল ‘সিরাজগঞ্জ ইকোনমিক জোন’।  এখানে উত্তরাঞ্চলের প্রায় পাঁচ লাখেরও বেশি মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।  রেড ক্রিসেন্ট একটি ভরসার জায়গা। দুর্যোগে জনগণের বন্ধু বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি।''আর্তমানবতার সেবায় নিজেকে বিলিয়ে দেওয়ার মধ্যেই রয়েছে জীবনের স্বার্থকতা। জীবনের উদ্দেশ্য নিজেকে খুশি করা নয়, অন্যকে খুশি করা হচ্ছে জীবনের অন্যতম উদ্দেশ্য।  বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও সিপিপি’র স্বেচ্ছাসেবকরা নিরলস পরিশ্রম করেছেন।গতকাল  শুক্রবার  সকালে   রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি সিরাজগঞ্জ ইউনিট এর উদ্যোগে সদর উপজেলার সয়দাবাদ, কান্দাপাড়া  ক্লাব ,শিয়ালকোল ইউনিয়ন,পলিটেকনিক  ইনস্টিটিউব সংলগ্ন এলাকায়  বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি সিরাজগঞ্জ ইউনিট এর আওতায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ,কোভিড ১৯ (করোনা ভাইরাসের) প্রাদুর্ভাবের কারনে কর্মহীন দুঃস্থ ও অসহায় ৪৮০ জন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী (ফুড প্যাকেজ) বিতরণ কালে তিনি  এ  কথা  বলেন । 

এসময়  সিরাজগঞ্জ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি’র সেক্রেটারি ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা কে,এম,হোসেন আলী হাসান,জেলা তথ্য  ও  গবেষণা  বিষয়ক সম্পাদক  আনোয়ার  হোসেন  ফারুক , উপজেলা যুগ্ম  আহবায়ক  আব্দুল সাত্তার বেলাল, শিয়ালকোল ইউনিয়ন  পরিষদের  চেয়ারম্যান  মোঃ  আব্দুল মান্নান  শেখ, 

সয়দাবাদ  ইউনিয়ন  পরিষদের  চেয়ারম্যান  মোঃ  নবীদুল ইসলাম , খোকশাবাড়ী ইউনিয়ন  পরিষদের  চেয়ারম্যান  মোঃ  রাশিদুল ইসলাম  রশিদ, খোকশাবাড়ী ইউনিয়ন  আ.লাগে  সভাপতি   মোঃ হেলাল উদ্দিন   সহ দলীয় নেতাকর্মী  উপস্থিত  ছিলেন । বন্যায় ক্ষতি গ্রস্ত  

পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, তেল, চিনি, লবন, সুজিসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী দেয়া হয়।

অসম্পুর্ণ প্রেম মিজানুর রহমান তোতা

 অসম্পুর্ণ প্রেম  মিজানুর রহমান তোতা





তোমার নির্মল চিত্ত গন্ধে হৃদ ইন্দ্রিয় স্নিগ্ধ

ভেতরের পুরোটাই টইটুম্বর রসে ভরা

স্পর্শবোধে জাগ্রত করে

দেয় বিরাট অস্থিরতা

হৃদয়ের কথাটা না বলতে পেরে হয়েছি দগ্ধ।


সৌরভে ছিলাম মাতোয়ারা, কিন্তু--

অনুভূতির রক্তরাঙা মনে জাগে না শিহরণ

তবুও ইচ্ছা তোমাকে পাশে পাবো আমরণ। 

হৃদকাননে ফুঁটলো ফুল

মেতে উঠলো সৌন্দর্য্য সম্ভারে।


হৃদয়ের সুর গাঁথা প্রেমের অনুষঙ্গে

ভাবনার মুখোমুখি দাঁড়িয়ে হাতটা বাড়ালাম

প্রত্যাশার কল্পনায় জট বাঁধলো

নখের আঁচড়ের দাগ না মুছতেই লন্ডভন্ড হলো। 


পরিপূর্ণ কথা বিনিময় হলো না

অসম্পুর্ণ প্রেমে বন্দি পাখি যন্ত্রণাকাতর

ছটফট করে অপেক্ষায় ফেরে আপন ভূবনে

তবুও বলতে ব্যাকুল অসম্পুর্ণ প্রেমের হৃদকথা।


তোমার প্রেম করো পূর্ণ

আমার প্রেম অসম্পুর্ণ

অবশেষে--

স্মৃতির ছোঁয়ায় পরিসমাপ্তি অসম্পুর্ণ প্রেমকাহিনী।

ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডুতে নিজ ঘরে বিধবা নারীর ঝুলন্ত লাশ

ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডুতে নিজ ঘরে বিধবা নারীর ঝুলন্ত লাশ


 



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান:ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডুতে উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রামে সালমা খাতুন (৩২) নামে এক বিধবা নারীর গলায় ফাঁস দেওয়া লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার গায়ে আঘাতের চিহ্ন পেয়েছে পুলিশ। শুক্রবার ভোরে ওই নারীর নিজ ঘরের আড়াই গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। এদিকে নিহতের স্বজনদের দাবি তাঁকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ এ ঘটনায় মোশারেফ হোসেন ও ছানা নামে দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে গেলেও তাদের মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দিয়েছে। নিহত নারী ওই গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের স্ত্রী। এলাকাবাসী জানায়, শনিবার রাত ৮টার দিকে পার্শ্ববর্তী রামচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত আখের আলীর ছেলে মতিয়ার রহমান ওই নারীর ঘরে ঢুকে ধরা পড়ে। আহাদনগর গ্রামের মোশারফ হোসেনসহ আরও কয়েকজন মতিয়ার ও সালমাকে আটক করে। এ সময় তারা সালমাকে মারধর করে ও মতিয়ারের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ছেড়ে দেয় বলে কথিত আছে। এদিকে লোক জানাজানির পর শুক্রবার ভোরে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় ঘরের আড়াই সালমার মৃতদেহ দেখতে পেয়ে প্রতিবেশিরা। কেও কেও বলছে ধরা পড়ার পর লোকলজ্জার ভয়ে সে আত্মহত্যা করেছে। তবে নিহত সালমার পিতা শমসের আলী অভিযোগ করেন, তার মেয়েকে বালিশচাপা দিয়ে হত্যা করে লাশ ঘরের আড়াই ঝুঁলিয়ে রাখা হয়েছে। হরিনাকুন্ডু থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এনামুল হক বলেন, আপাতত এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। তবে নিহতের মৃত্যু নিয়ে রহস্য রয়েছে। প্রকৃত ঘটনা জানতে মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট হাতে পেলে এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে করোনাভাইরাস সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে করোনাভাইরাস সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ





রিয়াজুল করিম রিজভী

চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান


 বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রকোপে বাংলাদেশসহ সারাবিশ্ব কাবু।বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ না কমায় পূর্বের ধারাবাহিকতায় সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেসক্লাব  এবার সারিকাইত ইউনিয়নের বাংলা বাজার চৌরাস্তার মোড়ে জেলেদের এবং বাজারে আসা মানুষদের মাঝে করোনা ভাইরাস সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করে।সকাল ৯ঃ৩০মি. থেকে ১০ঃ৩০মি.  পর্যন্ত এই সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়।সুরক্ষা সামগ্রীর মধ্যে ছিল,মার্স্ক ৪০০পিস,সাবান ১৫০ পিস ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার। সারিকাইত ইউনিয়ন  কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক সমাজকর্মী নোয়াব উল্লাহ্‌ কোম্পানির  সৌজন্যে সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে এই সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা 


উক্ত অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন ছাত্রনেতা মোঃ আতাউল্লাহ মেহেরাব খান ।  বিশেষ অতিথি ছিলেন- সন্দ্বীপ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সহ সভাপতি কাজী ফোরকান উদ্দীন মেম্বার , সারিকাইত ৫ নং ওয়ার্ড মেম্বার মিজানুর রহমান, সন্দ্বীপ আবহানী ক্রিড়া চক্রের অর্থ সম্পাদক মাষ্টার মামুনুর রশিদ সহ আরো অনেকেই।


সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাব নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছ সুমন,  যুগ্ম সম্পাদক প্রভাষক মোঃমহিউদ্দীন,  দপ্তর সম্পাদক আবদুর রহমান ইমন, সদস্য দৈনিক আলোর দিগন্তর সন্দ্বীপ প্রতিনিধি সবুজ দাস, দৈনিক গনমানুষের আওয়াজ সন্দ্বীপ প্রতিনিধি ইয়াসির আরাফাত।   অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ বৈশ্বিক এ মহামারীতে করোনাভাইরাস সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণের মত মানবিক উদ্যোগ গ্রহনের জন্য সন্দ্বীপ অনলাইন প্রস ক্লাব কে ধন্যবাদ জানান।

বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুর ইচ্ছাপূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

 বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুর   ইচ্ছাপূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা




নিউজ ডেস্কঃ বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন এক শিশুর ইচ্ছা পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলার ইচ্ছা প্রকাশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় দেয়া ভিডিও বার্তার প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী রায়া নামের ওই শিশুর সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে কথা বলেন।


প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব এ বি এম সরওয়ার-ই-আলম সরকার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন।


এ বি এম সরওয়ার-ই-আলম সরকার বলেন, ‘অটিজম ম্যানেজমেন্ট সেন্টার’ নামে অটিজম সম্পর্কিত একটি ফেসবুক গ্রুপে রিয়া নামের একটি বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু তার শিক্ষিকা হাসিনা হাফিজের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি তার ভালোবাসা উল্লেখ করে তার সঙ্গে কথা বলার স্বপ্ন জানিয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। 


তিনি বলেন, শিশুটির ভালোবাসায় সাড়া দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার দিকে রিয়ার সঙ্গে ভিডিওকলে যুক্ত হয়ে তার খোঁজ-খবর নেন। তার সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। 


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইতোমধ্যে রিয়া নামের ওই শিশুর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিডিওকলে কথা বলার ছবি অনেকেই শেয়ার করেছেন।

মহাপরিচালক থেকে অব্যাহতি নিলেন আহমদ শফি

মহাপরিচালক থেকে অব্যাহতি নিলেন  আহমদ শফি




মো: হাসান রিফাত

,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি। 



হাটহাজারী আল জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার মজলিসে শূরা কমিটির বৈঠক বৃহস্পতিবার রাত ৮ টা থেকে পৌনে ১১ টা পর্যন্ত মাদ্রাসার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। 


বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন মাদ্রাসার মহাপরিচালক ও হেফাজতের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

 বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আল্লামা সালাউদ্দীন নানুপুরী, মাওলানা নোমান ফয়েজি,মাওলানা সোহায়েদ নোমানী, মহিবুল্লা বাবু নগরী, মুফতী নুর আহম্মদ, মাওলানা দিদার, মাওলানা কবির আহম্মদ ও মাওলানা ফোরহান।

শূরা কমিটির বৈঠকে মাদ্রাসার মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফী অব্যাহতি নিয়েছেন ।


 তাকে বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুসারে মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষের প্রধান উপদেষ্টা নিয়োগ করা হয়েছে। অপরদিকে মাদ্রাসার এক শিক্ষক মাওলানা নুরুল ইসলাম কক্সবাজারিকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। ঘটনার সংবাদ পেয়ে চট্টগ্রাম-নাজিরহাট খাগড়াছড়ি মহাসড়কে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।

 তবে অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি। বৈঠকে মাদ্রাসার মহাপরিচালক নিয়োগ ব্যাপারে কোন সিন্ধান্ত হয়নি। শূরা কমিটির সদস্য মাওলানা সালাউদ্দীন নানুপুরী বৈঠকের সিন্ধান্ত মাইকে পাঠ করে শুনান।


আগামী শনিবার শূরার কমিটি বেঠক হওয়ার কথা থাকলে ও বিক্ষোভকারীদের দাবির মূখে বৃহস্পতিবার রাত ৮ টায় জরুরি বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

গত বুধবার থেকে ৫ দফা দাবি নিয়ে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন। ঐদিন রাতে শূরা কমিটির এক জরুরি বৈঠকে বিক্ষোভকারীদের ৫ দাবির মধ্যে দুই দাবি মেনে নিয়ে শনিবার পুনরায় আহুত বৈঠকে অন্যান্য দাবির ব্যাপারে আলোচনা করার কথা ছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকাল থেকে মাদ্রাসায় বন্ধের কথা প্রচারিত হলে বিক্ষোভকারীরা মাদ্রাসার সব ফটক বন্ধ করে বেলা ১১ টা থেকে পুনরায় বিক্ষোভ শুরু করেন। তাই শনিবারের পরিবর্তে বৃহস্পতিবার বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

তাছাড়া সন্ধ্যায় সরকারি এক প্রজ্ঞাপনে মাদ্রাসা বন্ধের ঘোষনা দিলেও বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা মাদ্রাসা বন্ধের সরকারি সিন্ধান্ত প্রত্যাখান করেন। বিক্ষোভকারীরা মসজিদের মাইকে বলেন- হাটহাজারী মাদ্রাসা সরকারি মাদ্রাসা নয় এবং সরকারি কোন অনুদানে মাদ্রাসা চলে না। তারা মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ ছাড়া অন্য কারো এখানে হস্তক্ষেপ করা উচিত নয় বলে উল্লেখ করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে মাদ্রাসার কোন ব্যাপারে হস্তক্ষেপ না করার আহবান জানান। শূরা কমিটি তথা মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষের সিন্ধান্ত ছাড়া অন্য কোন সিন্ধান্ত তারা মেনে না নেয়ার ঘোষনা দেন। বৈঠকে উপস্থিত শূরা কমিটি যদি মাদ্রাসা বন্ধের সরকারি ঘোষণা মেনে নেয়ার সিন্ধান্ত গ্রহণ করেন এতে তাদের কোন আপত্তি থাকবে না বলেও উল্লেখ করেন। সম্ভাব্য অপ্রীতিকর ঘটনার আশংকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা মাদ্রাসার বাইরে অবস্থান নেন।

হবিগঞ্জে ঝুলন্ত তরমুজে লাখ টাকার স্বপ্ন দেখছেন তৌহিদ

হবিগঞ্জে ঝুলন্ত তরমুজে লাখ টাকার স্বপ্ন দেখছেন তৌহিদ




লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:মাচায় দেখলে মনে হবে লাউ-কুমড়া ঝুলছে কিন্তু কাছে গিয়ে ভালো করে দেখলে ভুল ভাঙবে যে এগুলো লাউ বা কুমড়া কিছুই নয়। নেট দিয়ে মোড়ানো ব্যাগের ভেতরে এক একটা রসালো তরমুজ, হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার কৃষক তৌহিদ মিয়ার বাগানে গেলে অসময়ে এমন রসালো তরমুজ দেখে যে কারোরই মন ভরে যাবে। সাগর কিং জাতের এ তরমুজই এখন স্বপ্ন দেখাচ্ছে উপজেলার হাফিজপুর গ্রামের তৌহিদকে। সরেজমিনে পরিদর্শন করে দেখা যায় স্থানীয় কৃষি বিভাগের পরামর্শে তৌহিদ মিয়া এ উপজেলায় সর্বপ্রথম সাগর কিং জাতের তরমুজ চাষ করেছেন এজন্য উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শামীমুল হক শামীম তাকে। 


উন্নতজাতের বীজ সংগ্রহ করে দেওয়া থেকে শুরু করে নিয়মিত দিক নির্দেশনা দিচ্ছেন পরীক্ষামূলকভাবে মাত্র ২৫ শতক জমিতে জমিতে এ বীজ রোপণ করা হয়েছে। রোপণের ৫৫ দিনের মধ্যে তরমুজের ফুল ও ফল আসে। বর্তমানে প্রায় ৭০০ তরমুজ রয়েছে তার জমিতে। এদের মধ্যে কোনো কোনোটা ৩০০ থেকে ৪০০ গ্রাম ওজন হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে আর ১৫-২০ দিন পরেই তিনি তরমুজ সংগ্রহ করে স্থানীয় বাজারে বিক্রি করতে পারবেন এ তরমুজ উৎপাদনে তৌহিদ মিয়া প্রাকৃতিক জৈব সার ব্যবহার করেছেন এবং এতে কোনো বিষ প্রয়োগ করেননি। পোকামাকড় নিধনের জন্য তিনি ফেরোমন ফাঁদ ও ইয়োলো কালার ট্যাপ পদ্ধতি অনুসরণ করেছেন।


এসবই তিনি কৃষি অফিসের পরামর্শে করেছেন এতে এ পর্যন্ত তার প্রায় ৩৫ হাজার টাকা খরচ হয়েছে বর্তমানে বাজারে প্রতি কেজি তরমুজ পাইকারি বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকায়। আর খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায় সেই হিসেব করে লাভের আশায় কৃষক তৌহিদ মিয়া মুখে প্রশান্তির হাসি দীর্ঘ হচ্ছে কথা হলে কৃষক তৌহিদ মিয়া বলেন, করোনার সময়ে আমার হাতে কাজ ছিল না। তখন আমি বেশ চিন্তিত ছিলাম। এসময় আমি বিকল্প আয়ের সন্ধান করতে থাকি। এই সময় মাচায় তরমুজ চাষ সম্পর্কে কৃষি অফিস থেকে জানতে পারি এরপর এ বিষয়ে সামান্য প্রশিক্ষণ নিয়ে এই এলাকায়।


আমি প্রথম নোনা মাটিতে অসময়ের এ তরমুজ চাষ করি এজন্য আমার এখন পর্যন্ত ৩৫ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। আর কিছু দিন পর থেকে তরমুজ বিক্রি করতে পারবো। এভাবে উৎপাদন অব্যাহত থাকলে আশা করছি আমার সব খরচ বাদ দিয়ে কমপক্ষে ২ লাখ টাকা লাভ থাকবে আমার এলাকার কৃষক রুস্তম আলী বলেন, অসময়ে তরমুজ চাষ করে তৌহিদ মিয়া এলাকায় ভালই সাড়া জাগিয়েছেন আমি নিজে তার বাগান দেখে এসেছি বাগানে প্রচুর ফল এসেছে। আরও অনেক ফুল আছে আবহাওয়া ভাল থাকলে আরও অনেক ফল আসবে বলে মনে হচ্ছে।


এগুলো সে বিক্রি করে ভাল লাভ করতে পারবে হাফিজপুর গ্রামের আরেক কৃষক শওকত আলী বলেন, আমি তৌহিদের বাগান দেখেছি তিনি তরমুজ চাষে পুরোপুরি প্রাকৃতিক পদ্ধতি অনুসরণ করেছেন বলে তার খরচও অনেক কম হয়েছে। এমনকি তিনি জমিতে তেমন কীটনাশকও দেন নাই। তাই তার অনেক লাভ হবে। সরকারি সহযোগিতা ও পরামর্শ পেলে আগামী মৌসুমে এই পদ্ধতিতে তরমুজ চাষ আমিও করবো। শুধু আমি না এলাকায় এমন আরও অনেক কৃষক করবে।


উপজেলার দ্বিমুড়া কৃষি ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শামীমুল হক শামীম জানান, মোটিভেশনের মাধ্যমেই কৃষক তৌহিদ মিয়াই প্রথম হাফিজপুরে অফ সিজনে মাচায় তরমুজ চাষ করেছেন। আর মাত্র ২০ দিন পর তার বাগান থেকে এসব তরমুজ সংগ্রহ করে বাজারে বিক্রি করা যাবে। আশা করছি এ কৃষকের সফলতায় আগামী বছর অফ সিজনে উপজেলা জুড়ে এই তরমুজ চাষ বৃদ্ধি পাবে এদিকে মাচায় তরমুজ চাষ দেখতে প্রতিদিন আশপাশের এলাকার কৃষকরা তার (কৃষক-তৌহিদ) কাছে আসছেন।


 কীভাবে আগামীতে তারা নিজ নিজ জমিতে তরমুজ চাষ করবেন সে সম্পর্কে পরামর্শ নিচ্ছেন তিনি আরও জানান, পরিশ্রম করলে তার ফল আসবেই তার প্রমাণ পেয়েছেন কৃষক তৌহিদ মিয়া তার সামান্য জমিতে সাগর কিং জাতের তরমুজের বাম্পার ফলন হয়েছে। স্থানীয় কৃষি বিভাগের পরামর্শে চাষ করা এই ফসলই এখন স্বপ্ন দেখাচ্ছে উপজেলার আরও অনেক কৃষককে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবদুল আউয়াল বলেন এ কৃষক উপজেলায় তাক লাগিয়ে দিয়েছেন।


তার তরমুজ চাষ দেখে এলাকার অন্য কৃষকরা উৎসাহিত হয়েছেন অনেকেই এ জাতের তরমুজ চাষ করতে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আমরা কৃষকদের পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি হবিগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ তমিজ উদ্দিন খান জানান, বাহুবলে প্রথম সাগর কিং তরমুজ চাষে সফলতা এসেছে। আশা করা হচ্ছে দিন দিন তরমুজ চাষে কৃষকদের আগ্রহ বাড়বে আর আমরা বিষমুক্ত তরমুজ চাষে কৃষকদেরকে সব ধরনের পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি।

সাতক্ষীরা সীমান্তবর্তী ভোমরা সড়কে পুলিশের বিশেষ মাদকবিরোধী অভিযানে ডোপ টেস্টে ১৬ জন পজিটিভ

সাতক্ষীরা  সীমান্তবর্তী ভোমরা সড়কে পুলিশের  বিশেষ মাদকবিরোধী অভিযানে ডোপ টেস্টে ১৬ জন পজিটিভ

  



আহসান উল্লাহ বাবলু সাতক্ষীরা জেলা   প্রতিনিধি ঃ  সাতক্ষীরা সদর উপজেলার সীমান্তবর্তী ভোমরা সড়কে পুলিশের এক  বিশেষ মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালিত হয়েছে। অভিযানে ১৬ জন  আটক সন্দেহভাজন মাদকসেবীদের সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজে ডোপ টেস্ট করা  হলে ১৬ জনের ফলাফল পজিটিভ হয়েছে।সাতক্ষীরা সদরের ভোমরা এলাকায়, সাতক্ষীরা থানা পুলিশ এবং পুলিশ লাইন্স এর ২০ জন সদস্যের সমন্বয়ে মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সদর সার্কেল,সাতক্ষীরা, মির্জা  সালাহউদ্দিন এর নেতৃত্বে পরিচালিত এ অভিযানে অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব মোঃআসাদুজ্জামান, পুলিশ পরিদর্শক (অপা:) জনাব বিপ্লব সরকার, এসআই (নিঃ) প্রদীপ কুমার সানা, এসআই (নিঃ) মানিক কুমার সাহা, এসআই (নিঃ) হাবিব, এসআই (নিঃ) অহিদুলসহ অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা।সিভিল সার্জন এর কার্যালয়, সাতক্ষীরার মেডিকেল অফিসার ডা. জয়ন্ত সরকারও এসময় উপস্থিত ছিলেন। সাতক্ষীরা জেলার বিভিন্ন থানা ও অন্যান্য জেলার মাদকসেবীরা ভোমরার সীমান্তবর্তী এলাকায় এসে মাদক সেবন করে আবার নিজ নিজ এলাকায় চলে যাচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। বাহ্যিক লক্ষণ বিবেচনায় এবং উপস্থিত ডাক্তারের পরামর্শে মোট ৩৮ জনকে মাদকসেবী সন্দেহে ডোপ টেস্ট এর জন্য সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। ডোপ টেস্ট শেষে ১৬ জনের ক্ষেত্রে রিপোর্ট পজিটিভ এবং ২২ জনের ক্ষেত্রে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। মাদকাসক্ত প্রমাণিত ১৬ জন এর নিকট যে সমস্ত মাদক ব্যবসায়ী মাদক বিক্রি করেছিল, তাদেরকে শনাক্তের কাজ চলছে।এ সংক্রান্তে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ তে মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন।

উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের পক্ষ থেকে মোংলায় ৭শ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

 উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের পক্ষ থেকে মোংলায় ৭শ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা   

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের পক্ষ থেকে মোংলায় করোনাকালে কর্মহীন দরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে মোংলা বন্দর শ্রমিক কর্মচারী সংঘ চত্বরে স্থানীয় আওয়ামী লীগের আয়োজিত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক পৌর এলাকার ৭শ দরিদ্র পরিবারের হাতে এ খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন  মোংলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন, মোংলা উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি নয়ন কুমার রাজবংশী, মোংলা পৌর আওয়ামী লীগ এর সভাপতি শেখ আঃরহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক মোঃইব্রাহীম হোসেন সহ স্হানীয় আওয়ামীলীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।                                            

 খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় কেসিসি মেয়র আব্দুল খালেক বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সীমিতভাবে সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আমরাও আজ মোংলায় সকল নেতা, কর্মীদের নিয়ে সীমিত আকারে বর্ধিত সভা করে সাংগঠনিক কর্মকান্ড কিভাবে এগিয়ে নেয়া যায় সেই সিদ্ধান্ত নিবো। তিনি আরো বলেন, সামনে যে কমিটি করা হবে সেখানে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদকের সাথে জড়িতদের কোন স্থান হবেনা। 

পটিয়ায় নারী জাগরণ সংস্থার কমিটি গঠিত

পটিয়ায় নারী জাগরণ সংস্থার কমিটি গঠিত




সেলিম চৌধুরী পটিয়া প্রতিনিধিঃ - পটিয়া নারী জাগরণ সংস্থার কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে গত ৫ আগষ্ট   ২০২০ ইং  


সকাল ১০ ঘটিকার সময় মুন্সেফ বাজার সংলগ্ন কার্য়লয়ে    সময় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত সকলের মতামতের ভিত্তিতে  পটিয়া নারী জাগরণ সংস্থার নবগঠিত কমিটি গঠন করা হয়।   সভানেত্রী ডাক্তার ফারহানা আক্তার, সহ-সভানেত্রী মিসেস সুফিয়া বেগম, সাধারণ সম্পাদিকা  রিংকী দেব,


সহ সাধারন সম্পাদিকারিম্পা শীল,কোষাধ্যক্ষ মিসেস ছানোয়ারা বেগম, 


সাংগঠনিক সম্পাদিকা তাসলিমা আক্তার,


প্রচার সম্পাদিকা মিসেস কাজী রিনা আক্তার, 


সদস্যা রহিমা ইসলাম,


সদস্যা মিসেস শিখা রানী সেন, 


সদস্যাখতিজা বেগম, 


সদস্যা পারভীন আক্তার, 


সংস্থার বর্তমান সভানেত্রী ও সাধারণ সম্পাদিকা সকল সদস্যের শুভকামনা ও আন্তরিক সহযোগিতায় সংগঠনকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হওয়ার কথা ব্যক্ত করেন।করোনাভাইরাস মহামারির হাত থেকে দেশকে রক্ষা করার  জন্য মহান আল্লাহর রহমত কামনা করেন আর সকলকে সামাজিক  দূরত্ব বজায় রেখে মাক্স ব্যবহার করার আহবান  জানান। সভায় সংগঠনের   সভানেত্রী ডাক্তার ফারহানা আক্তার  উপস্থিত সকলকে   আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে সভা সমাপ্তি ঘোষণা করেন।