হবিগঞ্জে কর্মরত সাংবাদিক নেতৃবৃদের সাথে পুলিশ সুপারের পরামর্শ সভা

 হবিগঞ্জে কর্মরত সাংবাদিক নেতৃবৃদের সাথে পুলিশ সুপারের পরামর্শ সভা




লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি 


হবিগঞ্জ জেলা  উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিক নেতেৃবেৃন্দের সাথে হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা বিপিএম পিপিএম পরামর্শ সভা করেছেন।

পুলিশ সুপার হিসেবে হবিগঞ্জে চাকুরীর মেয়াদ দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে জেলার পুলিশ লাইন, পুলিশ সুপারের কার্যালয়, সবকটি থানাসহ পুলিশ ফাড়ির অবকাটামো উন্নয়ন ও আইন শৃঙ্খলার উন্নয়নে তার নেয়া বিভিন্ন কার্যক্রমের হিসাব তুলে ধরার পাশাপাশি সাংবাদিকদের সার্বিক সহযোগীতা কামনা করেন।


১৮সেপ্টম্বর ২০১৮ ইং তারিখে হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার হিসেবে মোহাম্মদ উল্ল্যা যোগদান করেছিলেন। চলতি মাসের ১৮ সেপ্টেম্বর পুলিশ সুপারের হবিগঞ্জে চাকুরীর মেয়াদ দুই বছর পূর্ণহয়। এরই প্রেক্ষিতে ১৯ সেপ্টেম্বর শনিবার সকালে পুলিশ সুপার কার্যালয় চত্তরে সাংবাদিকদের সাথে পরামর্শ সভায় মিলিত হন। এসময় পুলিশ সুপার বলেন সমাজ থেকে অপরাধ নির্মুলে পুলিশ সাংবাদিক এক হয়ে কাজ করতে হবে। যারযার অবস্থান থেকে পুলিশকে সহযোগিতা করুন।


প্রয়োজনে আপনাদের পরিচয় গোপন রেখে জেলা পুলিশ কাজ করবে মানুষের জানমালের নিরাপত্তায় জেলা পুলিশসহ বাংলাদেশের সকল পুলিশ সদস্য কাজ করে যাচ্ছে। সমাজ থেকে অপরাধ নির্মূলে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করেন। পুলিশের বিশেষ শাখায় কর্মরত ইন্সপেক্টর মোঃ আনিসুর রহমানের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আনোয়ার হোসেনসহ জেলা পুলিশের বিভিন্ন কর্মকর্তা।


এতে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি ইসমাইল হোসেন, সাবেক সভাপতি হারুনুর রশিদ চৌধুরী ফজলুর রহমান মোহাম্মদ নাহিজ হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক সাইদুজ্জামান জাহির হবিগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম খোকন হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক সৈয়দ এখলাছুর রহমান খোকন, চৌধুরী মোহাম্মদ ফরিয়াদ, হবিগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক সাইফুদ্দিন জাবেদ।


দিগন্ত টিভি ও দৈনিক নয়াদিগন্তের হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি এম এ মজিদ এম এ হালিম, সাংবাদিক লিটন পাঠান, সাংবাদিক প্রদ্বিপ দাশ সাগর শাকিল চৌধুরী আশরাফুল ইসলাম কোহিনুর মইনুল হাসান রতন নুর ইদ্দিন নুর উদ্দিন সুমন সরওয়ার সিকদার এস এম খলিলুর রহমান রাজুসহ জেলায় কর্মরত সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।

সিরাজগঞ্জ পাঁচঠাকুরি মসজিদটি যমুনার তীব্র স্রোতে বিলীন হয়ে যায়

সিরাজগঞ্জ পাঁচঠাকুরি মসজিদটি যমুনার তীব্র স্রোতে বিলীন হয়ে যায়



মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃশত চেষ্টা করেও মসজিদটি রক্ষা করা গেল না। যমুনার তীব্র স্রোতে শনিবার সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ছোনগাছা ইউনিয়নের পাঁচঠাকুরী গ্রামের মসজিদটি নদীতে বিলীন হয়ে যায়।

স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড বালুর বস্তা ফেলে মসজিদটি রক্ষার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। এতে স্থানীয়দের মধ্যে আবারও নতুন করে ভাঙন আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘গত জুলাই মাসে মসজিদটি ভাঙনের কবলে পড়ে। সে সময় বালুর বস্তা ফেলে মসজিদটি রক্ষায় চেষ্টা করা হয়েছিল। এদিকে, তিন দিন ধরে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেতে থাকে। কাজীপুর পয়েন্টে নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর ফলে যমুনার তীব্র স্রোতে মসজিদটি নদীতে বিলীন হয়ে যায়।’

গত জুলাইয়ে বন্যায় সদর উপজেলার ছোনগাছা ইউনিয়নের ১৫০ মিটার শিমলা স্পার বাঁধ নদীতে বিলীন হয়ে যায়। একই সঙ্গে শতাধিক ঘরবাড়ি, বসতভিটা ও গাছপালা মুহূর্তের মধ্যে নদীতে বিলীন হয়। সে সময়ই ভাঙনের মুখে পড়ে মসজিদটি।

সিরাজগঞ্জ বিনামূ্ল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি ও হতদরিদ্রের মাঝে গাভী বিতরণ

সিরাজগঞ্জ বিনামূ্ল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি ও হতদরিদ্রের মাঝে গাভী বিতরণ




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জ সদর চিলগাছা বটতলা ক্লাব এবং আবু হেনা মোস্তফা কামাল কাজল মেমোরিয়াল ব্লাড ফাউন্ডেশন এর যৌথ উদ্যোগে  বিনামূ্ল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি ও হতদরিদ্রের মাঝে গাভী বিতরণ। স্বেচ্ছায় রক্তদান, মানবতার জয় গান, মহৎ কাজ রক্ত দান মুমূর্ষ রোগীর জীবন বাঁচান এই শ্লোগান সামনে রেখে শনিবার সকল ৯ ঘটিকায় রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও হতদরিদ্রের মাঝে গাভী বিতরণ কর্মসূচি উদ্ভাধন করেন।আব্দুল বারী মন্ডল এর সভাপতিত্বে তারিকুল ইসলাম তারেক এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সদস্য নাসরিন ইসলাম তালুকদার, আবু হেনা মোস্তফা কামাল কাজল মেমোরিয়াল ব্লাড ফাউন্ডেশন এর পরিচালক মুঞ্জুর মোর্শেদ সজল, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, হায়দার আলী মাস্টার, আব্দুল রউফ তালুকদার, নাজিম উদ্দিন তালুকদার, আব্দুস ছাত্তার প্রা:, মুকুল হোসেন প্রা:, আমিনুল ইসলাম, রাশেদুর হাসান মামুন, নিবির তালুকদার, বিপ্লব সরকার সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। বটতলা ক্লাবের এডমিন মোঃ আমিনুল ইসলাম তিনি জানান, আমাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে এলাকার সবার রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করে রেজিস্টারে রেখে মুমূর্ষ রুগীকে যথা সময়ে বিনা মূল্যে রক্ত পৌছে দেওয়া। তারা আরো জানান, চিলগাছা গ্রামের মোঃ আফাজ উদ্দিন এর ছেলে বাকপ্রতিবন্ধি মোঃ আব্দুল মোমিন এর গত ৩০শে আগষ্ট ২০২০ইং তাহার ঘর থেকে চারটি গরু চুরি করে নিয়ে যাওয়ায় নিঃস্ব হয়ে যায়। তাই বটতলা ক্লাবের সার্বিক সহযোগিতায় তাকে একটি গাভি দেওয়া হয়।

মোংলা বন্দরে করোনা আক্রান্ত হয়ে ১ কর্মচারীর মৃত্যু ও শীর্ষ কয়েকজন কর্মকর্তা র্আক্রান্তের পর ১১ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের আদেশ জারি

মোংলা বন্দরে করোনা আক্রান্ত হয়ে ১ কর্মচারীর মৃত্যু ও শীর্ষ কয়েকজন  কর্মকর্তা র্আক্রান্তের পর ১১ সিদ্ধান্ত  বাস্তবায়নের আদেশ জারি


মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা:করোনা আক্রান্ত হয়ে মোংলা বন্দরের এক কর্মচারী মৃত্যু ও বর্তমানে বন্দরের শীর্ষ কয়েকজন কর্মকর্তাসহ  অনেকে অসুস্থ হওয়ার পর সকল কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখতে করণীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে কর্তৃপক্ষ। বন্দর কর্তৃপক্ষের পরিচালক প্রশাসন মো: গিয়াস উদ্দিন বুধবার এ ১১টি সিদ্ধান্ত কার্যকরের আদেশ জারি করেছেন। আদেশের প্রথম সিদ্ধান্তে বলা হয়েছে নিরাপত্তা, ট্রাফিক, হারবার, মেডিকেল এবং যান্ত্রিক ও তড়িৎ বিভাগের কাজের পরিধি অনুযায়ী নুন্যতম লোকবল দিয়ে কাজ পরিচালনার ব্যবস্থা করতে হবে। এছাড়া অন্যান্য বিভাগের কাজ কর্ম পালাক্রমে ২৫% লোকবল দিয়ে সম্পন্ন করতে হবে। দ্বিতীয়ত বিভাগীয় প্রধান ডিউটি রোস্টার প্রস্তুত করে দাপ্তরিক কাজ পরিচালনা করবেন। তৃতীয়, আবশ্যিকভাবে মাস্ক পরিধান ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মেরামত ওরক্ষণাবেক্ষণ এবং উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ যথা সময়ে সম্পন্নের ব্যবস্থা নিতে হবে। চতুর্থ, বিভাগীয় প্রধানরা পেক্ষাপট বিবেচনা করে উত্থাপিত ও আহুত যে কোন বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। পঞ্চম, পরিচালন কার্যক্রম অব্যাহত রাখার জন্য গণপরিবহণের ব্যবহার পরিহার করার জন্য প্রয়োজনে বন্দরে অবস্থিত ডরমেটরী/রেস্ট হাউস অস্থায়ীভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। ষষ্ঠ, বন্দরের বিভিন্ন অফিস, জেটি ও আবাসিক এলাকায় প্রবেশের সময় প্রবেশ মুখে স্থাপিত ডিজইনফেকটেন্ট ট্যানেল আবশ্যিকভাবে ব্যবহার করতে হবে। সপ্তম, আবাসিকের কর্মকতার্/কর্মচারীদের বাসার বর্জ্য বাসভবনের নিচে স্থাপিত ড্রামে রাখতে হবে। সেগুলো নেয়ার জন্য কেউই ভবনে উঠতে পারবে না। অষ্টম, কর্তৃপক্ষের ব্যবহৃত গাড়ীগুলো প্রতিনিয়ত জীবাণুমুক্ত রাখতে হবে। নবম, আবাসিক এলাকায় বহিরাগতদের প্রবেশ বন্ধ করতে হবে। দশম, অফিসসমূহ স্প্রে করে জীবাণুমুক্ত করতে হবে। সর্বশেষ একাদশ, কর্তৃপক্ষের সাথে আর্থিক লেনদেন সম্ভব হলে ক্যাশ/নগদের পরিবর্তে ব্যাংকের মাধ্যমে সম্পাদন করা যেতে পারে।


উল্লেখ্য, করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত সোমবার বন্দরের ট্রাফিক বিভাগের সহকারী তত্ত্বাবধায়ক আমির হোসেনের মৃত্যু হয়েছে। 


এছাড়া বর্তমানে আক্রান্ত রয়েছেন বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (হারবার ও মেরিন) ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ আলী, পরিচালক (প্রশাসন) গিয়াস উদ্দিন, হারবার মাষ্টার কমান্ডার ফখর উদ্দিন, সচিব ওহিউদ্দিন, প্রধান অর্থ ও হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা সিদ্দিকুর রহমান, পরিচালক (ট্রাফিক) মোস্তফা কামাল, সিভিল ও হাইড্রোলিক বিভাগের নিবার্হী প্রকৌশলী রাবেয়া রউফ, চেয়ারম্যানের একান্ত সচিব মাকরুজ্জামান মুন্সী ও তড়িৎ বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী উম্মে কুলসুম। 

পটিয়ায় প্রবাসীকে ক্রসফায়ারে হত্যা বিচার চেয়ে দোয়া মাহফিল

 পটিয়ায় প্রবাসীকে ক্রসফায়ারে হত্যা বিচার চেয়ে দোয়া মাহফিল



পটিয়া (চট্টগ্রাম)প্রতিনিধিঃ-    চকরিয়া থানা পুলিশের ক্রসফায়ারে নিহত পটিয়ার প্রবাসী মোঃ জাফর হত্যার বিচার চেয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর  শনিবার এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। পটিয়াস্থ কচুয়াই নিজ বাড়ী থেকে জাফরকে চকরিয়া থানার পুলিশ তুলে নিয়ে ৫০ লাখ টাকা দাবি করে। দাবিকৃত টাকা না পেয়ে পুলিশ গত ৩১ জুলাই 


ক্রসফায়ারে হত্যা করে।


নিরাপরাধ জাফরকে অন্যায়ভাবে হত্যার দায়ে জাফরের মামা মুক্তিযোদ্ধা   আহম্মদ নবী বাদী হয়ে গত ১৬ আগষ্ট পটিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে চকরিয়া থানার ওসি হাবিবুর রহমান ও হারবাং পুলিশ ফাড়িঁর ইনচার্জ আমিনুল ইসলামসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা  মামলা দায়ের করে। বর্তমানে মামলাটি সিআইডি চট্টগ্রাম জোনয়ের অধীনে তদন্ত চলছে। জাফর হত্যার জন্য দায়ী পুলিশের বিচার চেয়ে গতকাল শনিবার সকালে জাফরের বাড়িতে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মাহফিলে দরুদে নাড়িয়া শরীফ ও খতমে নুহ শরীফ পাঠ করা হয়। আল-আমিন বাড়িয়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মিসকাতুল ইসলাম মোজাহেরী মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন।এসময় মাওলানাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নাসির উদ্দীন, আহম্মদ হোসেন জিহাদী, জামাল আহাম্মদ, মুজিবুর রহমান আল-কাদেরী, জাকেরুল উল্লাহ  আজিজী, জসিম উদ্দীন, আবদুল মন্নান, এয়াছিন আরাফাত, এহসান উদ্দীন, ইমরানুল হক, আকতার হোসেন, রিয়াজ, নিহত জাফরের মা ছেনুয়ারা বেগম প্রমুখ।


এ ঘটনার ৫০ দিন পার হলেও নিহত জাফরের মায়ের কান্না থামেনি।তিনি  ১৯ সেপ্টেম্বর   শনিবার মাহফিলে ছেলের জন্য আহাজারিতে ভেঙ্গে পরেন। কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, আমার নিদোষী ছেলেকে পুলিশ তুলে নিয়ে হত্যা করেছে। আমি হত্যাকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক বিচার দাবী করছি। তার বাবা আবদুল আজিজ জানান, মামলা দায়েরের ১ মাস  গত হলেও সিআইডির সংশিষ্ট অফিসার মামলার দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি দেখাতে পারেনি।চকরিয়া থানার ওসি হাবিবুর রহমান ও হারবাং ফাড়িঁ ইনচার্জ খোশমেজাজে রয়েছে। পুলিশের কারণে তাদের পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে অভিযোগ করেন। 

যশোরে প্রয়াত নায়ক সালমান শাহ’র হত্যার নায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

 যশোরে প্রয়াত নায়ক সালমান শাহ’র হত্যার নায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন




সুমন হোসেন, যশোর জেলা প্রতিনিধি। 

বাংলা সিনেমার সুপারস্টার খ্যাত সালমান শাহর মৃত্যুর ২৪ বছর পেরিয়েছে।এত বছর পরেও প্রিয় নায়কের জন্য ভক্তদের হাহাকার থেমে নেই। সালমানের ৪৯তম জন্মদিন স্মরণে হত্যার ন্যায়বিচারের দাবিতে শনিবার বেলা ১২ টায় প্রেসক্লাব যশোরের সামনে মানববন্ধন করেছে সালমান ভক্তরা। কাঠেরপুল যুব সংঘের সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে যশোরের বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ অংশ নেন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মৃত্যুর দুই যুগ পেরিয়ে গেলেও এখনও তার মৃত্যুরহস্য উন্মোচিত হয়নি। মুলত সালমানের ব্যাপক জনপ্রিয়তার বিষয় একটি পক্ষ মেনে নিতে না পেরে পরিকল্পিত ভাবে তাকে হত্যা করেছে। কিন্তু তারা এখন দুধে ধোয়া তুলসি পাতা সাজছেন। তারায় ঘটনাটি ভিন্ন খ্যাতে নিতে অপচেষ্টা চালাচ্ছে। সালমান ভক্তরা তা কখনোই  মেনে নেবেনা।  প্রয়োজনে ন্যায়বিচারের দাবিতে সারাদেশের ভক্তরা একত্রিত হয়ে রাজপথ উত্তাল করে তুলবে । একই সাথে তারা এ বিষয়ে প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।  মানববন্ধনে প্রধান বক্তা ছিলেন কাঠেরপুল যুব সংঘের উপদেষ্টা সাংবাদিক জাহিদ আহম্মেদ লিটন। আরো বক্তব্য রাখেন সালমান ভক্ত  ব্যবসায়ী সাজ্জাদ হোসেন বাবু, রিকি খান, শাহেদ উর রহমান রনি, ডি এন মিথুন, রায়হান উদ্দীন, সৈয়দ আলামিন আবিদ, শফিকুল রহমান, মিজানুর রহমান, বিল্লাল হোসেন প্রমুখ। মানববন্ধনে  সাংবাদিকদের মধ্যে অংশ নেন সাজ্জাদুল কবীর মিটন, এম আর খান মিলন, আয়যুব হোসেন মনা, মাসুদ রানা বাবু, জাহিদ হাসান । তারাও হত্যার ন্যায় বিচারের দাবি জানান। মানববন্ধন শেষে সালমান শাহ’র রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। কাঠেরপুল যুব সংঘের পরিচালক শিমুল ভূইয়া কর্মসূচী সমাপনী ঘোষনা করেন।

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ইস্কাটন রোডে নিজ বাসা থেকে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা সালমান শাহের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ ও আসামিপক্ষের ভাষ্যমতে লাশ পাওয়া গিয়েছিল ‘ঝুলন্ত অবস্থায়’ এবং এটি আত্মহত্যা।

অন্যদিকে সালমানের মা নীলা চৌধুরী সহ প্রয়াত এই নায়কের স্বজন- ভক্তরা মামলার শুরু থেকেই দাবি করে আসছেন এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড এবং লাশ ছিল বিছানায়। সালমানের পরিবারের নারাজি আবেদনে মামলাটি আবারও আদালতে ওঠে। পরবর্তীতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআইকে) দিয়ে পুনরায় আলোচিত এ মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়।

ঝিনাইদহে করোনা সচেতনায় করোনা নাটক নিয়ে মানুষের পাশে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক হীরক মুশফিক

ঝিনাইদহে করোনা সচেতনায় করোনা নাটক নিয়ে মানুষের পাশে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক হীরক মুশফিক


সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের শৈলকুপায় করোনা সচেতনায় করোনা নাটক নিয়ে এক ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক হীরক মুশফিক। শৈলকুপার কুতি সন্তান ময়মনসিংহের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার এন্ড পারফর্মেন্স স্টাডিজ বিভাগের এই শিক্ষকের উদ্যোগে শৈলকূপা কেন্দ্রীক বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন পর্যায়ের  শিক্ষার্থীদের নিয়ে করোনা অসচেতন মানুষের সচেতন করার জন্য গড়ে তোলা হয় "করোনা স্কোয়াড এক" নামে স্বেচ্ছাসেবী দল। 

করোনাকালে যখন সকল ধরনের সাংস্কৃতিক চর্চা বন্ধ ঠিক সেই সময়ে নাটকের মাধ্যমে মানুষের সচেতন করার ব্যতিক্রমী প্রচেষ্টা সাড়া ফেলেছে মানুষের মনে।

   উদ্ভাবক ও নির্দেশক শিক্ষক হীরক মুশফিক নিজ চিন্তা চেতনা খেকে এটির নাম দিয়েছেন 'করোনাট্য'। করোনাকালীন সময়ের নাটক বিধায় এর নামকরণ  করা হয়েছে করোনাট্য বলে জানা যায়। তিনি এই করোনাট্য নিয়ে বিরামহীনভাবে ছুটে চলেছেন বিবেকের তাড়নায় এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায়।তার এই নাটক দেখে সমাজের একটি মানুষও যদি সচেতন হয় তবেই তার এই স্বার্থকতা।

 অসচেতন মানুষকে করোনার ভয়াবহতা সম্পর্কে সচেতন করা, সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে সাধারণকে সহায়তা করা, কোয়ারেন্টাইন, লকডাউন সম্পর্কিত ধারণা প্রদানে বিশেষ একটি নাট্য প্রয়োগ করছেন তিনি এবং তার দল।  অভিনয় করেন দুই থেকে সাতজন অভিনেতা। স্থানীয় বাজার, চা বা সবজি দোকান, মোড়, মোটকথা জনাকীর্ণ স্থানে প্রদর্শিত হয় এই পরিবেশনা। করোনা বিষয়ে  অসচেতন সাধারণ  মানুষ এই নাট্যের দর্শক। যতদূর জানা যায়, করোনা নাটক নিয়ে অসচেতন মানুষের সচেতন করার উদ্যোগ বাংলাদেশে এটিই প্রথম।

অন্তত  ৮ টি শর্ত  মেনে এই নাট্যপ্রক্রিয়াটি নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করার চেষ্টা করছেন বলে জানান করোনা স্কোয়াড প্রতিষ্ঠাতা হীরক মুশফিক। তিনি বলেন 'নাট্যের এমন প্রয়োগ নানা সময়ে নানা ভাবে হয়েছে, যেহেতু নাটক একটি সম্মিলিত শিল্প, ফলে এই করোনাকালে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে এটির পরিবেশনা সবচাইতে বড় চ্যালেঞ্জ। করোনা সচেতনতায় করোনা স্কোয়াড এর আগে দেশে বা দেশের বাইরে আর কেউ এভাবে সরাসরি নাট্য পদ্ধতির প্রয়োগ করেছে এমন তথ্য জানা নেই।

 শিক্ষক হীরক মুশফিক এর দিক নির্দেশনায় করোনার শুরু থেকে শৈলকুপার কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে সেবার গাড়ি নামে স্বেচ্ছাসেবী দল গঠন করে তাদের মাধ্যমে ত্রাণ তৎপরতা,মাস্ক বিতরণ, বৃক্ষরোপন, ওষুধ,  অর্থ সহায়তা প্রদানের মতো নানা স্বেচ্ছাসেবামূলক কাজ করে চলেছে। করোনাকালীন সময়ে শিক্ষক হীরক মুশফিকের একের পর এক এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ।তার এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ ছড়িয়ে যাক দেশের বিভিন্ন জায়গায় এই প্রত্যাশা সবার।

আশাশুনি উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের তাঁতি লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

আশাশুনি উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের তাঁতি লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা





আহসান উল্লাহ বাবলু সাতক্ষীরা  প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলা তাঁতীলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম গতিশীল করার লক্ষ্যে উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের তঁাতী লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিটি ইউনিয়ন কমিটি গঠন করা হবে। শনিবার আশাশুনি উপজেলা তঁাতীলীগের আহবায়ক মোঃ হুমায়ুন কবির রাসেল ও সদস্য সচিব মোঃ জুয়েল রানা স্বাক্ষরিক এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

চেতনার সংলাপ মিজানুর রহমান তোতা

চেতনার সংলাপ  মিজানুর রহমান তোতা



নিজেকে প্রশ্ন করি আমি কী চেতন

না  অবেতন? 

চেতনায় অনুভূতি জ্ঞান বোধ হুঁশ জাগরণ

অবচেতনে জ্ঞানের অন্তরালের অবস্থান।


বিবেক কোথায়?

একটু ভাবছি না কেন?

কী করছি, কোথায় চলেছি, কীভাবে চলছি?

যা পাচ্ছি গোগ্রাসে খাচ্ছি

অসময়ে জীবন হারাচ্ছি।


বাছবিচার করছি না 

দেখছি না ভালো মন্দ

জীবনবোধের ব্যতয় প্রেরণা

সমাজ সভ্যতা বেহুঁশভাবে হাসছে

সব প্রাণীরই ঘেলু একরকম, নেই শুধু বোধ।


নিজের মনের কাছে প্রশ্ন

সংলাপে চেতন অবেতন দ্বন্দ্ব

সমাধান সূত্র বড়ই জটিল

মানুষের কল্যাণ উপকার স্বদেশচিন্তা অনুপস্থিত

চাওয়া পাওয়া বাসনার ধ্যান জ্ঞান।


আমিত্ব নিয়ে ব্যস্ত সময়

প্রেম ভালোবাসা অভিনয়

চেতনায় স্বার্থ, 

দৃশ্যমান যা কিছু তা অবচেতনে

দিশাহীন বিরোধ রহস্যময়তা মানুষের মনে।

মাধবপুরে নিরাপত্তার অজুহাতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের রাস্তায় বেস্টনি

 মাধবপুরে নিরাপত্তার অজুহাতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের রাস্তায় বেস্টনি


লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি 


হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান প্রবেশ পথে টিন দিয়ে বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আগত রোগী শিক্ষার্থী ও এলাকার অর্ধশত পরিবারের লোকজন চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। কোয়ার্টার মাইল ঘুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীদের আসতে হচ্ছে দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার কয়েক দিন পরেই উপজেলা কমপ্লেক্সে নিরাপত্তার স্বার্থে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যাওয়ার পথ টিন দিয়ে বেড়া দিয়ে আটকে দেয়া হয়।


ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক থেকে উপজেলা কমপ্লেক্সের মধ্য দিয়ে বড় একটি পাকা রাস্তা দীর্ঘদিন যাবত ব্যবহৃত হয়ে আসছিল। হঠাৎ করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে প্রশাসন রাস্তা বন্ধ করে দিয়ে বিকল্প পথে চলাচল করতে বলা হয়। সরকারি রাস্তা বন্ধ থাকায় রোগীর গাড়ি বিকল্প সড়ক দিয়ে প্রায় কোয়ার্টার মাইল ঘুরে হাসপাতালে যেতে হচ্ছে। অন্যদিকে বিকল্প সড়কটি পুরোপুরি সংস্কার না হওয়ায় ও জনসমাগম লেগে থাকায় ও সরু হওয়ায় প্রায় সময় যানজট সৃষ্টি হয়ে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। হাসপাতাল এলাকার অনেক বাসিন্দা উপজেলা পরিষদের সামনে দিয়ে সড়কটি ব্যবহার করে।


ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যেত কিন্তু ওই সড়কে বেড়া দেয়ায় হাসপাতাল এলাকার অনেক পরিবার বিকল্প সড়ক ব্যবহার করতে গিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছে।

মাধবপুর উপজেলার প্রেমদাময়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও আদর্শ নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়টির অবস্থান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরে হওয়ায় এ রাস্তা বন্ধ থাকায় সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। অনেক সময় অপচয় করে বিকল্প রাস্তা ব্যবহার করতে হচ্ছে।

হাসপাতাল এলাকার বাসিন্দা দুলাল চৌধুরী জানান হাসপাতাল এলাকারও 


উপজেলা কমপ্লেক্সের পেছনে একটি আবাসিক এলাকা গড়ে উঠেছে ওই এলাকায় ৪০-৪৫টি পরিবার বসবাস করে। সবাই এ সড়কটি ব্যবহার করে। হঠাৎ করে সড়কটি বন্ধ করে দেয়ায় সবাই দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছে। কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও অগ্নিকান্ডের ঘটনা হলে ফায়ার সার্ভিস পর্যন্ত আসতে পারবে না। অনেকটা অবরুদ্ধ এলাকাবাসী

হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা মারুফা বেগম জানান, তিনি তার মেয়েকে নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে এসেছেন কিন্তু হঠাৎ করে দেখতে পান সড়কে বেড়া দেয়া।


তাই সিএনজি ঘুরিয়ে বিকল্প সড়ক দিয়ে হাসপাতালে আসতে হয়েছে এতে পরিবহন খরচ ও সময় দুটিই বেশি লেগেছে। মাধবপুর প্রেমদাময়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুছা মিয়া জানান, বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ থাকলেও অনেক শিক্ষার্থী ভর্তি হতে ও সার্টিফিকেট নিতে বিদ্যালয়ে আসেন। কিন্তু হঠাৎ করে সড়কে বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দেয়ায় শিক্ষার্থী অভিভাবক ও আমরা সমস্যায় পড়েছি। এ রাস্তাটি উন্মুক্ত করে দেয়া না হলে অনেক পরিবার শিক্ষার্থী ও চিকিৎসক ও রোগীরা চরম সমস্যার মুখে পড়বে।


মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ইশতিয়াক আল মামুন জানান, দীর্ঘদিন যাবত এ রাস্তাটি হাসপাতালের কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। হঠাৎ করে রাস্তায় বেড়া দেয়ায় রোগী ও রোগীদের স্বজনরা চরম সমস্যার মুখে পড়েছে। বড় গাড়ি নিয়ে হাসপাতালে প্রবেশ করা যাচ্ছে না। কেউ কেউ সিএনজি দিয়ে বিকল্প সড়ক পথে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসছে।

তিনি জানান হাসপাতালের বরাদ্দকৃত ওষুধ নিয়ে বড় কার্গো এলে উপজেলা প্রশাসন বেড়া কিছুটা খুলে দেয় পরে আবার বন্ধ করে দেয়। 


উপজেলা প্রশাসন বলছে নিরাপত্তার কারণে এ সড়কটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসনুভা নাশতারান জানান, দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর সারা দেশে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলা কমপ্লেক্সের নিরাপত্তা ও বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে এ সড়কটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে রোগীদের হাসপাতালে যেতে সমস্যা নেই তারা বিকল্প সড়কটি ব্যবহার করবে।

নওগাঁর আত্রাইয়ে আ’লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

 নওগাঁর আত্রাইয়ে আ’লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত



মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

রাজশাহী ব্যুরো


 নওগাঁর আত্রাইয়ে উপজেলা আ’লীগের আয়োজনে আগামী ১৭ অক্টোবর নওগাঁ-৬ উপ-নির্বাচন উপলক্ষে এক বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার সকালে উপজেলার সাহেবগঞ্জ আ’লীগ দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নৌকা মার্কার প্রার্থী মো. আনোয়ার হোসেন হেলাল। এতে সভাপতিত্ব করেন আত্রাই উপজেলা আ’লীগ সভাপতি নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলাল। সাধারন সম্পাদক চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদলের সঞ্চালনায় সহ-সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান এবাদুর রহমান প্রামানিক, ইউপি চেয়ারম্যান আক্কাছ আলী, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক বরুন কুমার সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক নাহিদ ইসলাম বিপ্লব, প্রচার সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান আফছার আলী প্রাং,যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগ, কৃষকলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলা লীগ সভাপতি ও সম্পাদক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন ।

সভায় বক্তারা আগামী ১৭ অক্টোবর নৌকা মার্কার বিজয় নিশ্চিত করে শান্তি ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালি করতে অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

হবিগঞ্জে চোরের ছুরিকাঘাতে পুলিশ সদস্য আহত ও চোর আটক

 হবিগঞ্জে চোরের ছুরিকাঘাতে পুলিশ সদস্য আহত ও চোর আটক


লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:হবিগঞ্জ পৌর শহরের নাতিরপুর এলাকায় চোরের ছুরিকাঘাতে এএসআই আবুল কালাম নামে এক পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। আহত অবস্থায় ওই পুলিশ সদস্যকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

১৮-সেপ্টেম্বর রাতে নাতিরপুর পুরাতন রেলস্টেশন এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে এদিকে এ ঘটনায় জড়িত চোর আলা উদ্দিনকে ছোড়াসহ আটক করেছে পুলিশ।


পুলিশ জানায় আলাউদ্দিনসহ তার সহযোগীরা ওই এলাকায় চুরির পরিকল্পানা করছে এমন তথ্য পেয়ে সেখানে অভিযান চালায় এএসআই আবুল কালামের নেতৃত্বে চৌধুরী বাজার পুলিশ ফাড়ির একটি টিম। এসময় আলা উদ্দিনকে আটক করতে চাইলে সে পুলিশের সাথে দস্তাদস্তি করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্ঠা করে। এক পর্যায়ে কোমরে থাকা ছুরি দিয়ে ওই পুলিশ সদস্যকে আঘাত করে।


পরে পুলিশ তাকে ছুড়াসহ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে আহত পুলিশ সদস্য জানান, আটক হওয়া চোর আলাউদ্দিন মাদক সেবনকারী এছাড়াও সে একজন চিহ্নিত চোর তার বিরুদ্ধে চুরির মামলা রয়েছে সে হবিগঞ্জ পৌর এলাকার নাতিরপুরের আমজাদ আলীর ছেলে।

হবিগঞ্জে সুন্দরী গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ

হবিগঞ্জে সুন্দরী গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ



লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি


হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট উপজেলায় সুন্দরী গৃহবধূ ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই গৃহবধূ নিরূপায় হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার শ্রীকুটা গ্রামের কাওসার মিয়ার সুন্দরী স্ত্রী (১৯) এর উপর কুনজর পড়ে একই গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের পুত্র ইকরামুল জালালের। প্রায়ই ওই গৃহবধূকে সে কুপ্রস্তাব দিতো। এতে সে রাজি না হলে জালাল ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর ভোরে কেউ বাড়ি না থাকার সুযোগে জালাল ও তার সহযোগী দুলাল গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে তাকে প্রবেশ করে তাকে ঝাপটে ধরে ধর্ষণ করে।


গৃহবধূর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এসে জালালকে আটক করে উত্তম মধ্যম দেয় এ সময় সহযোগী দুলাল পালিয়ে যায়। পরে বিষয়টি সমাধানের আশ্বাস দিয়ে মাতব্বররা জালালকে ছাড়িয়ে নেয় পরে সমাধান না হলে ওই গৃহবধূ থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা না নেয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার ওই গৃহবধূ হবিগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে মামলা করেন। বিচারক মামলা আমলে নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে চুনারুঘাট থানায় প্রেরণ করেন। ঘটনার পর থেকেই ধর্ষকরা আত্মগোপন করে বলে বাদি জানায়।

খুব শীঘ্রই স্থায়ী ও মজবুত বেড়ি বাঁধের নির্মাণ কাজ শুরু হবে-ডাঃ রুহুল হক এমপি

 খুব শীঘ্রই স্থায়ী ও মজবুত বেড়ি বাঁধের নির্মাণ কাজ শুরু হবে-ডাঃ রুহুল হক এমপি


আহসান উল্লাহ বাবলু সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধিঃ    আশাশুনি: সুপার সাইক্লোন আম্পান ও আম্পান পরবর্তী সময়ে নদী রক্ষা বাঁধ ভেঙে প্লাবিত আশাশুনির   প্রতাপনগর, শ্রীউলা ও আশাশুনি সদর ইউনিয়নের আংশিক এলাকায় খুব শীঘ্রই স্থায়ী ও মজবুত বেড়ি বাঁধ নির্মাণ কাজ শুরু হবে। কয়েক মাসের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার বেড়িবাধ পুনঃনির্মাণে সফল হতে না পারায় দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি। সাতক্ষীরা জেলার নদী ভাঙ্গন এলাকার মানুষের মানবেতর জীবন যাপনের বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা পর্যন্ত অবহিত আছেন। আমি প্রতিটি মুহূর্তে পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট উদ্ধতন কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ রেখেছি। আমাকে আশ্বস্ত করা হয়েছে এক মাসের মধ্যে স্থায়ী ও মজবুত বেড়ি বাঁধের কাজ শুরু করা হবে। তিনি আরও বলেন, সাতক্ষীরা জেলার ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ নির্মাণে দুই হাজার কোটি টাকা বরাদ্ধ আসছে। আমার বিশ্বাস ওই পরিমাণ টাকার কাজ হলে আমাদেরকে ভবিষ্যতে এরকম দুঃসময়ের মুখোমুখি হতে হবে না। শনিবার সকাল থেকে আশাশুনি উপজেলার নদী রক্ষা বাঁধ ভেঙে প্লাবিত এলাকা প্রতাপনগর, শ্রীউলা ও আশাশুনি সদরে আংশিক পরিদর্শনকালে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, সাতক্ষীরা-০৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃ আফম রুহুল হক এমপি।


প্রতাপনগর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন শেষে ইউনিয়নের অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন তিনি।


বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শনের একপর্যায়ে এপিএস কলেজ পরিদর্শনে যান অধ্যাপক ডাঃ আফম রুহুল হক এমপি। এ সময় কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কলেজ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সংক্ষিপ্ত মতবিনিময় করেন তিনি।


পরিদর্শনকালে সফরসঙ্গী ও অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড-২ এর নির্বহী কর্মকর্তা সুধাংশু সরকার, আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা, থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির, সাংসদ প্রতিনিধি ও উপজেলা আ'লীগের সাধারণ সম্পাদক শম্ভুজিত মন্ডল, উপজেলা আ'লীগের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম মোল্যা, নীল কন্ঠ সম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, 

আওয়ামী লীগের  সাংগঠনিক সম্পাদক আশাশুনি সদর ইউপি চেয়ারম্যান সম সেলিম রেজা মিলন, শ্রীউলা ইউপি চেয়ারম্যান আবুহেনা শাকিল, প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন, আনুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি  ঢালী মোঃ সামছুল আলম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি এসএম সাহেব আলী, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রনজিত বৈধ, প্রভাষক দীপঙ্কর বাছাড় দীপু,  আসাদুজ্জামান আসু, আরিফুল ইসলাম, মৃণাল কান্তি মন্ডল, সিরাজুল ইসলামসহ কালিগঞ্জ ও দেবহাটা উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।

ঝিনাইদহে করোনা আক্রান্ত হয়ে নারীর মৃত্যু এই নিয়ে ৫৭ জনের লাশ দাফন

 ঝিনাইদহে করোনা আক্রান্ত হয়ে নারীর মৃত্যু এই নিয়ে ৫৭ জনের লাশ দাফন


সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃঝিনাইদহে করোনা আক্রনাত হয়ে শনিবার ভোরে মোছাঃ নার্গিস খাতুন (৪৫) নামে এক গৃহবধুর মৃত্যু হয়েছে। তিনি সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের নাছির উদ্দীন মন্ডলের স্ত্রী। ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক আব্দুল হামিদ খান জানান, গত ১১ সেপ্টম্বর করোনা উপসর্গ নিয়ে নার্গিস খাতুন ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। ১৩ সেপ্টম্বর তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসলে তাকে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় নার্গিস খাতুন শনিবার ভোরে ইন্তেকাল করেন। ঝিনাইদহ জেলার জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ ও পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সিনিয়র ফিল্ড সুপারভাইজার আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে নিজ গ্রামে দাফন করা হয়। এই নিয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশন ঝিনাইদহ গঠিত লাশ দাফন কমিটি ৫৭ জন করোনা আক্রান্ত ও করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তির লাশ দাফন সম্পন্ন করলো।

আন্তর্জাতিক সর্প দংশন সচেতনতা দিবস পালিত ঝিনাইদহে

আন্তর্জাতিক সর্প দংশন সচেতনতা দিবস পালিত ঝিনাইদহে

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃ

‘চিকিৎসা আছে সর্প দংশনে সরকারী হাসপাতালে, সবখানে’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে ঝিনাইদহে আন্তর্জাতিক সর্প দংশন সচেতনতা দিবস পালিত হয়েছে।

সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে শনিবার সকালে সিভিল সার্জনের কার্যালয় চত্বর থেকে একটি র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সিভিল সার্জন ডা: সেলিনা বেগম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা: রাশেদা সুলতানা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,  সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা: হারুন-অর-রশিদ, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা: প্রসেনজিৎ বিশ্বাস পার্থ, মেডিকেল অফিসার ডা: তালাত তাসনিম শুভ, সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার ওয়াহিদুজ্জামান।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, সাপে কামড়ালে গ্রামীন চিকিৎসা না দিয়ে হাসপাতালে আনতে হবে। হাসপাতালে সর্প দংশনের চিকিৎসা রয়েছে। এছাড়াও সচেতনতা বাড়াতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান বক্তারা।

রাজনীতির এক উজ্জ্বল নক্ষত্র বাগেরহাটের কৃতি সন্তান মোতাহার হোসেন প্রিন্স

রাজনীতির এক  উজ্জ্বল নক্ষত্র বাগেরহাটের কৃতি সন্তান মোতাহার হোসেন প্রিন্স




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, বাগেরহাট 

বাগেরহাট জেলার রামপাল উপজেলার সদর ইউনিয়নের কাদির খোলা তিপুলবুনিয়া গ্রামে এক সম্ভান্ত্র মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন রাজনীতির এক উজ্জ্বল নক্ষত্র মোতাহার হোসেন প্রিন্স।তার পিতার নাম মোঃ মোস্তফা আমীর হোসেন।চাকুরী জীবনে তার পিতা ছিলেন একজন সরকারী কর্মকর্তা।তিনি ছিলেন  রামপাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর ফ্যামিলি প্লানিং কর্মকর্তা। চার ভাই ও এক বোন এর সংসারে মোতাহার হোসেন প্রিন্স ছিলো সেজো।     ছোট বেলা থেকেই মোতাহার হোসেন প্রিন্স    ছিলো দুরন্ত ও মেধাবী। স্কুল জীবন থেকেই সে ছিলো খুব মেধাবী ছাত্র।

খেলাধুলার প্রতি ও তার আগ্রহ কম ছিলো না একজন ভালো খেলোয়াড় হিসাবেও এলাকায় তার ব্যাপক পরিচিত ছিলো। পাশাপাশি রাজনীতিতে সে ছিলো সক্রিয় স্কুল জীবনে সে কাদির খোলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় এ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এর দায়িত্ব পালন করেন।মাধ্যমিক এর গন্ডি পেরিয়ে সে ভর্তি হয় বাগেরহাট জেলার সেরা বিদ্যাপিঠ বাগেরহাট পিসি কলেজে। পড়াশুনার পাশাপাশি রাজনীতিতে তিনি ছিলেন নিয়মিত। পড়াশোনার পাশাপাশি পিসি কলেজ ছাত্রলীগের সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন মোতাহার হোসেন প্রিন্স।উচ্চ মাধ্যমিক এর গন্ডি পেরিয়ে সে ভর্তি হয় বাংলাদেশের সর্বশ্রেস্ঠ বিদ্যাপিঠ। উপমহাদেশের অক্সফোর্ড ক্ষ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানেও থেমে থাকেনি তার রাজনীতী।বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর তিনি হলে থেকেই পড়াশোনা করতেন।তিনি থাকতেন জিয়াউর রহমান হলে।হলে থাকা অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতিতে তার হাতে খড়ি।প্রথমে  তিনি হল কমিটি ছাত্রলীগের  সদস্য নির্বাচিত হন।বেশ কিছু দিন দায়িত্ব পালন করেন তিনি।এরপর তার রাজনৈতিক দুরদর্শিতার কারনে অল্প দিনের মধ্যেই সে জিয়া হল ছাত্রলীগের  সাধারণ সম্পাদক এর দায়িত্ব পান।দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের জিয়া হলের ছাত্রদের দের সকল ন্যায় সংগতি পূর্ণ দাবি আদায়ের পেছনে তার ভূমিকা ছিলো অতুলনীয়।দলীয় কর্মকাণ্ডে ও তার ভূমিকা ছিলো ব্যাপক।আস্তে আস্তে তার রাজনৈতিক দুরদর্শিতার কারনে পুরো বিশ্ববিদ্যালয়ে সে হয়ে ওঠে একজন জনপ্রিয় ছাত্রনেতা।স্লোগান মাস্টার হিসাবেও পরিচিত লাভ করে পুরো ক্যাম্পাস জুড়ে।তার যোগ্যতার কারনেই অল্প কিছুদিনের মধ্যেই নজরে আসেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। তিনি তাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ  সম্পাদক এর দায়িত্ব দেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের   সাধারন সম্পাদক হওয়ার পর পরই তার কর্মদক্ষতা দিয়ে জয় করে নেন তার ক্যাম্পাস এর সকল ছাত্রছাত্রী দের মন।সবার কাছে তিনি পরিচিত হন অসহায় এর বন্ধু হিসাবে।দীর্ঘ দুই বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক এর দায়িত্ব পালন করেন।এ দুই বছর কোন অন্যায় বা দূর্নীতির সাথে আপোষ করে নাই মোতাহার হোসেন প্রিন্স।তার আমলে তিনি ক্যাম্পাস সহ আশেপাশের এলাকা মাদক মুক্ত করেছেন।সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা যেন নির্ভয়ে ক্যাম্পাসে চলাফেরা করতে পারে সেদিকে সে বিশেষ ভাবে নজর রাখতেন।যে কোন ধরনের অন্যায় ও দূর্নীতির হাত থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে রক্ষা করাই ছিলো তার মূল লক্ষ্য। বর্তমানে সে যুবলীগের একজন সাধারণ কর্মী হিসাবে রয়েছে।


খুব শ্রীগ্রই যুবলীগের পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে বলে শোনা যাচ্ছে।  কমিটিতে সকলের আশা জননেত্রী শেখ হাসিনা অবশ্যই একজন দক্ষ্য,সৎ,সাহসী,জনবান্ধন ছাত্রনেতা বর্তমান যুবলীগ নেতা মোতাহার হোসেন প্রিন্স কে তার যোগ্যতম স্হানে  বসাবেন।


কোন পোস্ট এর চাহিদা বা পছন্দের কোন পোস্ট চান কিনা কেন্দ্রীয় যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে এমন প্রশ্নের জবাবে ছাত্রলীগের  সাবেক সাধারণ সম্পাদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মোতাহার হোসেন প্রিন্স বলেন, ব্যক্তিগত ভাবে কোন পোস্টের প্রতি আমার কোন চাহিদা নেই।জননেত্রী শেখ হাসিনা আপা উনিই আমার অবিভাবক উনি যেটা ভালো মনে করবেন আমি সেটাই মেনে নেবো। আমি কোন পোস্ট চাই না আমি চাই জননেত্রী শেখ হাসিনা আপার কর্মী হয়ে সারা জীবন আপার পাশে থেকে জনগনের কল্যানে কাজ করতে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ ও জরিমানাসহ সরঞ্জামাদি জব্দ

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ ও জরিমানাসহ সরঞ্জামাদি জব্দ


মোরশেদ আলম

যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি:

যশোরের কেশবপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে পরিচালনা করে বাউশলা গ্রামের একটি মাছের ঘের থেকে বালু উত্তোলন বন্ধ ও মেশিন জব্দ করেছেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ইরুফা সুলতানা ৷


ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, (১৮ সেপ্টেম্বর) শুক্রবার ৪ নং বিদ্যানন্দকাটী ইউনিয়নের বাউশলা গ্রামের নিজস্ব মাছের ঘের থেকে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছেন একই গ্রামের মৃত হাসেম আলী মহলদারের ছেলে মোসলেম মহলদার। এমন সংবাদের ভিত্তিতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ইরুফা সুলতানা ঘটনাস্থলে পৌঁছে সত্যতা যাচাই করে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ ও অন্যান্য সরঞ্জামাদিসহ মেশিন জব্দ করেন ৷ এ ঘটনায় আসামি মোসলেম মহলদারকে (বালু মহল ও মাটি সংরক্ষণ আইন ২০১০ এর ১৫/১ ধারায়) ৫০,০০০ (পঞ্চাশ হাজার) টাকা জরিমানা আদায় করেন ৷


এ ব্যাপারে কেশবপুর উপজেলা ভূমি অফিসের নাজির ফারুক হোসেন জানান, বাউশলা গ্রামের নিজস্ব মাছের ঘের থেকে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছেন মোসলেম মহলদার ৷ ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ ও বালু উত্তোলনের অন্যান্য সরঞ্জামাদিসহ মেশিন জব্দ করে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের জিম্মায় রাখা হয়েছে ৷

নওগাঁয় সেচ্ছাসেবী সংগঠন রূপসী নওগাঁর পরিচালনায় 'ইত্যাদি ডট কমে'র যাত্রা শুরু

 নওগাঁয় সেচ্ছাসেবী সংগঠন রূপসী নওগাঁর পরিচালনায় 'ইত্যাদি ডট কমে'র যাত্রা শুরু




রাজশাহী ব্যুরো:

নওগাঁর সেচ্ছাসেবী সংগঠন রূপসী নওগাঁ এর সেচ্ছাসেবী কার্যক্রম পরিচালনার সুবিধার্থে 'আস্থা ও বিশ্বাসের ঠিকানা ' এই স্লোগানকে সামনে রেখে আনুষ্ঠানিক ভাবে যাত্রা শুরু করলো অনলাইন শপ ‘ইত্যাদি ডট কম’। শনিবার সকাল ১১ ঘটিকায় সেচ্ছাসেবী সংগঠন রূপসী নওগাঁ এর আয়োজনে শহরের বন্ধু কর্ম হল রুম নওগাঁয় আনুষ্ঠানিকভাবে ইত্যাদি ডট কমের যাত্রা শুরু হয়।


রূপসী নওগাঁ পরিচালক খালেদ বিন ফিরোজের সভাপতিত্বে ইত্যাদি ডট কমের আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রূপসী নওগাঁর উপদেষ্টা সাংবাদিক ও শিক্ষক কাজী কামাল হোসেন।

এই সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন নওগাঁ বিসিক শিল্পনগরী কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ারুল আজিম সেতু, এলজিইডি নওগাঁ উপ সহকারী প্রকৌশলী মোঃ রুমন হাসান, রূপসী নওগাঁ এর উপদেষ্টা ও নওগাঁ সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রিফাত হোসাইন সবুজ, এন এস ডিস্ট্রিবিউশন এর পরিচালক নাজমুল হক সহ রূপসী নওগাঁ সংগঠন ও ইত্যাদি ডট কম এর কার্য নির্বাহী সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন হাফেজ আঃ মুমিন।

রূপসী নওগাঁর পরিচালক ডেন্টিস্ট খালেদ বিন ফিরোজ পণ্যের গুণগত মান এবং সহজলভ্যতা নিশ্চিতের অঙ্গীকার করেন। তিনি বলেন, প্রথমত নিত্য প্রয়োজনীয় শতভাগ খাঁটি কিছু পণ্য আমাদের অনলাইন শপ থেকে কেনা যাবে। তিনি আরও বলেন ইত্যাদি ডট কমের লাভ রূপসী নওগাঁর সেচ্ছাসেবী কার্যক্রম পরিচালনায় ব্যয় করা হবে।

পটিয়ার দক্ষিণ ভুর্ষি ইউপি সাবেক মেম্বার পুলক বিকাশের মৃত্যুতে চেয়ারম্যানের শোক

 পটিয়ার দক্ষিণ ভুর্ষি ইউপি সাবেক মেম্বার পুলক বিকাশের মৃত্যুতে চেয়ারম্যানের শোক




সেলিম চৌধুরী পটিয়া প্রতিনিধিঃ পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সিনিয়র সহসভাপতি ও সাবেক পটিয়া উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি এবং পটিয়া চেয়ারম্যান সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম         দক্ষিণ  ভূর্ষি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি সদস্য, পটিয়া উপজেলা ইউ.পি মেম্বার সমিতির মেম্বারদের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত প্রথম সফল সাধারণ সম্পাদক, হিন্দু-বৌদ্ধ-খিষ্টান ঐক্য পরিষদ পটিয়া শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক,পটিয়া পূজা উদযাপন পরিষদের  সাবেক সহ-সভাপতি ও শিক্ষানুরাগী মাষ্টার বাবু পুলক বিকাশ দে'র মৃত্যুত্যে গভীর শোক প্রকাশ ও শোকসপ্ত পরিবারবর্গ প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। একইভাবে পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ তরুণ নেতা বিশিষ্ট সমাজ সেবক দক্ষিণ ভুর্ষি যুবসমাজের অহংকার মোঃ মঞ্জুল ইসলাম গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং মরহুম এর আত্মার সর্গীয় কামনা করেছেন। 


তিতাসের ৮ কর্মকর্তা কর্মচারি গ্রেফতার!

তিতাসের ৮ কর্মকর্তা কর্মচারি গ্রেফতার!




শিপন, নারায়ণগঞ্জঃনারায়ণগঞ্জের মসজিদের বিস্ফোরনের ঘটনায আজ শনিবার দুপুরে তিতাসের ৮ কর্মকর্তা গ্রেফতার করেছেন সিআইডি।দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন সিআইডির ডিআইজি মাইনুল আহসান।


গ্রেফতার কৃতরা হলেন, তিতাসের ফতুল্লা অঞ্চলের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম,উপ ব্যবস্থাপক মাহাবুবুর রহমান রাব্বি,সহকারি প্রকৌশলি হাচান শাহরিয়ার, মানিক মিয়া,সুপারভাইজার মুনিবুর রহমান চৌধুরী,সিনিয়র উন্নয়ন কারি মো আইউব আলী,হেলপার হানিফ মিয়া,ও কর্মচারি ইসমাইল প্রধান।


ডিআইজি বলেন তদন্তের জন্য রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

করোনার মহামারিতেও দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রেখেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি

করোনার মহামারিতেও দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রেখেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি


মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেছেন, কোভিড-১৯ মোকবেলার পাশাপাশি দেশের উন্নয়ন কার্যক্রমকে তরান্বিত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে, এই মহামারির সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কেউ যেন দেশের অর্থনৈতিক ক্ষতি না করতে পারে সরকার সেদিকেও লক্ষ রেখেছে। তিনি বলেন,  মহামারির পর থেকে স্কুল-কলেজ সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সার্বিক তত্তাবধানে অনলাইন সহ বিভিন্ন পন্থায় শিক্ষা ব্যবস্থাকে চালু রাখা হয়েছে। হুইপ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন এই মহামারির সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশের ন্যয় দিনাজপুরেও করোনা মোকাবেলায় পর্যাপ্ত ব্যয় করেছেন। ফলে দিনাজপুরে করোনা পরিস্থিতি অনেকটা ভাল। তিনি এই করোনার মধ্যেও শিক্ষকরা বিভিন্ন ভাবে ও অনলাইনে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় মনোযোগী করে রেখেছে উল্লেখ করে বলেন, আমার বিশ্বাস স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসার পরও শিক্ষা ব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্থ হবে না। 

১৯ সেপ্টেম্বর শনিবার হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি দিনাজপুর সদর উপজেলার ৩নং ফাজিলপুর ইউনিয়নের হরিরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঝানজিরাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের উদ্বোধনী অনুুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। যার মোট ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ৯১ লাখ ২৪ হাজার টাকা। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ইমদাদ সরকার, উপজেলা প্রকৌশলী ফিরোজ আহমেদ, দিনাজপুর শহর যুবলীগের সভাপতি ও পৌরকাউন্সিলর আশরাফুল আলম রমজান, ৩নং ফাজিলপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ইউসুফ তালুকদার, ই্উনিয়ন আওয়ামীলীগর নেতা অভিজিৎ বসাক, মোতাহার হোসেন, রিচিন্দ নাথ বসাক ছুটু, আনোয়ার হোসেনসহ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ।

আর্থিক সাহায্য ও ত্রান সহযোগিতা করলেন যুব অধিকার পরিষদের চরফ্যাশন শাখা

 আর্থিক সাহায্য ও ত্রান সহযোগিতা করলেন যুব অধিকার পরিষদের চরফ্যাশন শাখা




মোঃ আওলাদ হোসেন জেলা প্রতিনিধি দৌলতখান (ভোলা) 

ভালোবাসার আরেক নাম যুব অধিকার পরিষদ । সংগঠনটির সাংগঠনিক ভিত্তি গ্রামে গন্জে ততটা সক্রিয় না থাকা সত্বেও সংগঠনটির তৃনমূল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ তাদের ব্যাক্তিগত অর্থ দিয়ে যাকে যেভাবে সম্ভব সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে। যেমনটি করেছে বাংলাদেশ যুব ছাত্র অধিকার পরিষদ ভোলা জেলা শাখা পক্ষ থেকে  চরফ্যাশন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানার  ১৫ নং অধ্যক্ষ নজরুল নগর ইউনিয়নের মোঃ নুর ইসলাম মাঝি কে নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী অনুদান দিলেন।সেখানে উপস্থিত  ছিলেন  যুব অধিকার পরিষদ এর মোঃ সাইদুল ইসলাম ভোলা জেলা শাখা সদস্য ও যুব অধিকার পরিষদ এর চরফ্যাশন উপজেলার সদস্য মোঃ আল আমিন হাওলাদার। চরফ্যাশন উপজেলার  ছাত্র অধিকার পরিষদের  আহ্বায়ক শাহা পরান জয় ও দক্ষিণ আইচা থানার ছাত্র অধিকার পরিষদ এর সদস্য মোঃ সাইফুল ইসলাম হাওলাদার।

হবিগঞ্জে নিজের কিশোরী মেয়েকে ধর্ষন করলেন পিতা মায়ের মামলায় স্বামী কারাগারে

 হবিগঞ্জে নিজের কিশোরী মেয়েকে  ধর্ষন করলেন পিতা মায়ের মামলায় স্বামী কারাগারে




লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি


হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলায়

১৩ বছরের কিশোরীকে ধর্ষনের দায়ে এক কুলাঙ্গার পিতাকে আটক করেছে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে নবীগঞ্জ  উপজেলার ৪নং দীঘলবাক ইউনিয়নের জিয়াপুর গ্রামে মামলার বিবরণে জানা যায় ওই গ্রামের মোঃ আব্দুস সালাম (৪০) সিএনজি চালক। সে প্রায় ১৫ বছর পূর্বে  বিয়ে করে গোয়ালাবাজার এলাকায়। তাদের দাম্পত্য জীবনে দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। গত ১৩ সেপ্টেম্বর আব্দুল সালামের স্ত্রী মোছাঃ হাছিনা বেগম (৩২) এর কাছে ১৩ বছর ও ৭ বছরের দুই মেয়েকে রেখে তিনি পিত্রালয় গোয়ালাবাজারে যান।


স্ত্রী বাড়ি থেকে যাওয়ার পরপরই কুলাঙ্গার বাবার কু-নজর পড়ে তার ১৩ বছর বয়সী কিশোর মেয়ের উপর। ঐ দিন দিবাগত রাত অনুমান ১১টার সময় তার মেয়ে দুটি ঘুমিয়ে যাওয়ার পরপরই পিতা আব্দুস সালাম তাদের ঘরে সু- কৌশলে প্রবেশ করে ঘমন্ত অবস্থায় জনৈক ১৩ বছর বয়সী মেয়েটির মুখে চেপে ধরে উপর্যুপরি ধর্ষন করেন। ধর্ষন শেষে মেয়েকে হুমকি দিয়ে বলে এ বিষয় কাউকে কিছু বললে তকে হত্যা করে ফেলবো। এমন নিষ্টুর আচরণ মেয়েটি কোন মতেই মেনে নিতে পারছেনা হত্যার ভয়ে আবার তার মাকেও বলতে পারছেনা। 


কিন্তু সত্য বেশী দিন চাপা থাকে না এ ঘটনার কয়েকদিন পর মা হাসিনা বেগম বাড়ীতে আসেন। বাড়িতে আসার পরে তার ১৩ বছরের মেয়েটির রহস্যজনক আচরণ- আচরন দেখে মা-জননী বিষন চিন্তায় পড়ে যান। অবশেষে মা তার মেয়েকে জিজ্ঞেস করেন, যে তর কি হয়েছে এমন মন মরার মতো কেন চলাফিরা করতেছত কারণ কি পরে মেয়েটি মাকে কান্না জড়িত কন্ঠে সবকিছু খুলে বলে দেয়। মেয়ের এমন কথা শুনে মা কি আর এই জ্বালা ও নিষ্টুরতা সইতে পারে? অবশেষে মেয়ের মা হাছিনা বেগম বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় গতকাল একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেন।


এরই দারাবাহিকতায় গত বৃহস্পতিবার গভীর রাত ৩টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুলাঙ্গার আব্দুস সালামকে (৪০)কে ইনাতগঞ্জ ফাড়িঁ  পুলিশ গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। পরে নবীগঞ্জ থানায় আনা হয় এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি অপারেশন আমিনুল ইসলাম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বিষয়টি আসলেই দুঃখজনক।


সারা দেশে চলছে মহামারি করোনা ভাইরাসের ভয়। এর মধ্যে একজন পিতা হয়ে তার আপন মেয়েকে কি ভাবে ধর্ষন করলো কতো বড় পাষন্ড হলে এমন কাজ করতে পারে না। পরদিন আমরা থাকে হবিগঞ্জ বিজ্ঞ আদালতে পাঠালে বিচারক দীর্ঘ শোনানী শেষে তাকে হবিগঞ্জ জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জেলা ও দায়রা জজের একটি মানবিক আদেশ পাগলীর নবজাতক সন্তান পেল সংসার

জেলা ও দায়রা জজের একটি মানবিক আদেশ পাগলীর নবজাতক সন্তান পেল সংসার



আহসান উল্লাহ বাবলু  সাতক্ষীরা  জেলা প্রতিনিধিঃ মানুষিক ভারসাম্যহীন এক নারী। কিছুদিন আগেও ঘুরে বেড়াতো পথে পথে। থাকতো খেয়ে না খেয়ে। মাঁথা গোজার ঠাঁইটুকুও ছিল না তার। কিন্তু কোন এক নর-পশুর লালসার শিকার হন তিনি। হয়ে পড়েন অন্ত:সত্বা। জন্ম দেন ফুটফুটে একটি কন্যা সন্তানের। পাগলী মাধুরী এবং তার নবজাতক কন্যা সন্তানের দায়িত্ব নিতে চায়নি কেউ। অবশেষে সংবাদ কর্মীরা পত্রিকার পাতায় তুলে ধরলেন মাধুরী ও তার নবজাতক মেয়ের অসহায়াত্বের কথা।


নবজাতকের দায়িত্ব নিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, কালিগঞ্জের কাছে আবেদন জানালেন তৃতীয় লিঙ্গের একজন নারী। শিশু কন্যা সন্তানটি দত্তকসহ ভারসাম্যহীন নারীর দায়িত্ব নিতে আরও আবেদন জানালেন শ্যামনগর উপজেলার বড়কুপট গ্রামের


মুক্তিযোদ্ধা জিএম হুমায়ুন কবীরের ছেলে ঔষধ কোম্পানীর এরিয়া ম্যানেজার জিএম মাসুম কবীর ও তার স্ত্রী স্কুল শিক্ষক  হোসনেআরা খাতুন। উপজেলা সমাজ সেবা কার্যালয়, কালীগঞ্জ মাধুরী ও তার মেয়েকে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রেখে দেখভাল করতে থাকেন এবং দত্তক সংক্রন্ত আবেদন দুটির বিষয় নিষ্পত্তির জন্য শিশু কল্যাণ বোর্ড, কালীগঞ্জের রেজুলেশনের কপিসহ পৃথক একটি আবেদন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল, সাতক্ষীরার ভারপ্রাপ্ত বিচারক সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান এর নিকট প্রেরণ করেন। বিচারক শিশু কল্যাণ বোর্ড, কালীগঞ্জের রেজুলেশনের কপিসহ দত্তক সংক্রান্ত আবেদন দুটি পর্যালোচনা করে গত সোমবার এক মানবিক আদেশ দেন। আদেশে তিনি বাস্তব অবস্থা এবং প্রেক্ষাপট বিবেচনা করে মানুষিক ভারসাম্যহীন নারী মাধুরী, পিতা-শ্যামাপদ, গ্রাম-বংশীপুর, উপজেলা-শ্যামনগর এর শিশু কন্যাকে শ্যামনগর উপজেলার বড়কুপট গ্রামের জি এম হুমায়ুন কবীরের ছেলে  জি এম মাসুম কবীর ও তার স্ত্রী  হোসনেআরা খাতুন দম্পত্তির বরাবর দত্তক হিসাবে হস্তান্তর করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সদস্য সচিব উপজেলা শিশু কল্যাণ বোর্ড, কালীগঞ্জ, সাতক্ষীরাকে নির্দেশ দেন। এছাড়া মানুষিক ভারসাম্যহীন মাধুরীকে সেভহোম, দশআনি, বাঁগেরহাট বরাবর প্রেরণের জন্য উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা, কালীগঞ্জকে নির্দেশ দেন।


সাতক্ষীরার সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমানের অতি মানবিক ওই নির্দেশটি প্রাপ্ত হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সদস্য সচিব উপজেলা শিশু কল্যাণ বোর্ড, কালীগঞ্জ এবং সমাজ সেবা অফিসার, কালিগঞ্জ যৌথভাবে গতকাল দুপুরে পাগলী মাধুরীকে আগে সেভহোম, বাগেরহাটে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন এবং পরে মাধুরীর ফুটফুটে কন্যা সন্তানটিকে ওই শিক্ষক দম্পত্তির হাতে তুলে দেন।


এ ব্যাপারে কালিগঞ্জের সমাজ সেবা কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল্লাহ আল-মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, দত্তক নেওয়া ওই শিক্ষক দম্পত্তি শিশু সন্তানটির ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তার নামে প্রতিমাসে দুই হাজার টাকা করে এফ. ডি আর এবং দুই বিঘা জমি লিখে দিবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।


অপরদিকে দত্তক নেওয়া শিক্ষক দম্পত্তি জানান, তাদের বিবাহীত জীবন ১৪/১৫ বছর হলেও কোন সন্তান হয়নি। তারা শিশুটিকে আদালতের আদেশে পেয়ে বেজায় খুশি। ওই দম্পত্তি তাদের সন্তানটির জন্য সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন।

মশিউর রহমান এর নির্দেশে, মহেশপুর সাবেক যুবদল নেতার কবর জিয়ারত

মশিউর রহমান এর নির্দেশে, মহেশপুর সাবেক যুবদল নেতার কবর জিয়ারত

 



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান। 

বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা মন্ডলির অন্যতম সদস্য, ঝিনাইদহ -২ আসন থেকে বার বার নির্বাচিত সাবেক সংসদ সদস্য, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি'র সাবেক সফল সংগ্রামী সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা জননেতা আলহাজ্ব মসিউর রহমানের নির্দেশে। শুক্রবার সন্ধায় মহেশপুর উপজেলা ৪ নং স্বরুপপুর ইউনিয়ন যুবদলের সাবেক সভাপতি মোঃ আলমগীর কবির মিন্টুর রুহের মাগফেরাত কামনা করার জন্য,  কবর জিয়ারত করতে জান, মহেশপুর উপজেলা বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক, তরফদার মাহামুদ তৌফিক বিপু। এবং আরো উপস্থিত ছিলেন মহেশপুর পৌর বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক, মোঃ সাইফুল ইসলাম। স্বরুপপুর ইউনিয়ন বিএনপির, সদস্য সচিব, মোঃ জুলফিকার আলি।  মহেশপুর পৌর যুবদলের আহবায়ক মোঃ আশরাফুল ইসলাম। ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের সদস্য, মোঃ ওমর আলি।  আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি সংসদের ঝিনাইদহ জেলা সদস্য মোঃআবু জাফর বাবু, ইসমাইল হোসেন, লিটন মন্ডল, জুবায়ের মুন্সী ।মহেশপুর উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক, মোঃ সুরুজ্জামান। মহেশপুর উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক, মোঃ সোরোয়ারদী শাহীন। মহেশপুর উপজেলা মৎস্য জীবী দলের সদস্য, মোঃ ফিরোজ মিয়া। ৬ নং নেপা ইউনিয়ন যুবদলের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক মোঃ হক সাহেব। আয়নাল হক, সিপন, কামরুল, জসিম,আনিসুর, লিটন,জুবায়ের, ইসমাইল, কামাল সহ বিএনপি ও অংগ সংগঠনের স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। 


এবং সকলেয় মহান আল্লাহ’র দরবারে প্রার্থনা করেন তিনি যেন জান্নাত উল ফেরদৌস নসীব করেন ও নিকটজনদেরকে ধৈর্য্য ধারন করবার তৌফিক দান করেন। 

        আমিন

আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ একটি শক্তিশালী পরিবার তা প্রমানিত হয়েছে- শাহাজাহান খান এমপি

আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ একটি শক্তিশালী পরিবার তা প্রমানিত হয়েছে- শাহাজাহান খান এমপি

সেলিম চৌধুরী পটিয়া প্রতিনিধিঃ  সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী  বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শাহাজাহান খান এমপি বলেছেন স্বাধীনতার জন্য আমরা যুদ্ধো করেছিলাম এবং স্বাধীনতা অর্জন করেছি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে।দেশের উন্নয়ন আজ সারাবিশ্বে প্রংশসিত হয়েছে বর্তমানে এ করোনা পরিস্থিতিতে খাদ্য সংকট নেই সরকার সব কিছুই করছে, কিন্তু দেশের বিরুদ্ধে একটি চক্র নানান যড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে তাদের ব্যাপারে নতুন প্রজন্মকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।


তিনি আওয়ামীলীগের সভানেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারা বরনে  বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের নেতাকর্মীদের রাজপথের ভূমিকা তুলে ধরে বলেন সেদিন এ সংগঠন দায়িত্বশীল ভূমিকা রেখেছিল তা আমাদের মনে রয়েছে আগামীতে আপনারাই মাঠের কর্মী ও সংগঠক হিসাবে স্বীকৃতি অর্জন করবেন, তিনি সকলকে ঐক্যবদ্বভাবে দেশকে এগিয়ে নিতে কাজ করার আহবান জানান ।


 তিনি গত শুক্রবার বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের ১৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আয়োজিত সমাবেশ ও র‍্যালীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। সংগঠনের সভাপতি এডভোকেট আসাদুজ্জামান দূর্জয়ের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুন্সি এবাইদুল ইসলাম এর পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রসিডিয়াম সদস্য রফিকুল ইসলাম নান্নু,মোহাম্মদ ইব্রাহিম,কামরুল হাসান বাবু,খন্দকার আলমগীর,জাহাঙ্গীর আলম,  মিসেস উম্মি জামান, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক খন্দকার শাখাওয়াত হোসেন, শাহীন আলম,জাহিদ হোসেন,কামাল হোসেন,মিজানুর রহমান,সরওয়ার হওলাদার,সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর আলম, খোকন বেপারী,আরিফ হোসেন জামাল,প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বাবু, যুব বিষয়ক সম্পাদক মির হোসেন,একে এম রহুল হক,জয়নাল আবেদীন সুজন,রিতু আকতারসহ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের থানা ওর্য়াড কমিটির নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।


পরে এক বিশাল র‍্যালী ঢাকার প্রধান প্রধান সড়ক পদক্ষিন শেষে কেক কেটে সংগঠনের ১৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করা হয়.

আমীরে হেফাজত আল্লামা শাহ আহমদ শফী(দা.বা)'র কর্মময় জীবন ও গুনাবলী

 আমীরে হেফাজত আল্লামা শাহ আহমদ শফী(দা.বা)'র কর্মময় জীবন ও গুনাবলী




নিউজ ডেস্ক: বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও শিক্ষানুরাগী, হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল প্রায় ১০৪ বছর।


১৯১৬ সালে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া থানার পাখিয়ারটিলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন আহমদ শফী। তিনি হেফাজতে ইসলামের প্রতিষ্ঠাতা ও আমির ছিলেন। তিনি চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার‌ আল-জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার মহাপ‌রিচাল‌ক ছিলেন।


আল্লামা শফী শিক্ষাজীবন শুরু করেন রাঙ্গুনিয়ার সরফভাটা মাদ্রাসায়। এরপর পটিয়ায়র আল জামিয়াতুল আরাবিয়া মাদ্রাসায় লেখাপড়া করেন। ১৯৪০ সালে তিনি হাটহাজারীর আল-জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসায় ভর্তি হন। ১৯৫০ সালে তিনি ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসায় লেখাপড়া করেন। ১৯৮৬ সালে হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক পদে যোগ দেন আহমদ শফী। এরপর থেকে টানা ৩৪ বছর ধরে তিনি ওই পদে ছিলেন। শাহ আহমদ শফী ২০১০ সালে হেফাজতে ইসলাম প্রতিষ্ঠা করেন এবং এর আমিরের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।


বাংলায় ১৩টি ও উর্দুতে নয়টি বইয়ের রচয়িতা তিনি। তার লেখা বইয়ের মধ্যে রয়েছে; বাংলা ভাষায়- হক ও বাতিলের চিরন্তন দ্বন্দ্ব, ইসলামী অর্থ ব্যবস্থা, ইসলাম ও রাজনীতি, সত্যের দিকে করুন আহ্বান, সুন্নাত ও বিদ-আতের সঠিক পরিচয় এবং উর্দু ভাষায়- ফয়জুল জারি (বুখারির ব্যাখ্যা), আল-বায়ানুল ফাসিল বাইয়ানুল হক ওয়াল বাতিল, ইসলাম ও ছিয়াছাত এবং ইজহারে হাকিকাত।


২০১৩ সালে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে গণজাগরণ আন্দোলন শুরুর পর হেফাজতে ইসলামের নেতৃত্বে আহমদ শফী বেশি আলোচনায় আসেন। ২০১৭ সালে আল্লামা শফীর সাথে বৈঠকের পর কওমি সনদের স্বীকৃতি এবং সুপ্রিম কোর্ট থেকে ভাস্কর্য অপসারণের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক হিসেবে কওমি মাদ্রাসাগুলোর নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলেন ‘বড় হুজুর’ নামে পরিচিত আহমদ শফী।


দেশের শীর্ষ কওমী আলেম আল্লামা আহমদ শফীর শরীরের বাসা বাঁধে নানা রোগ। ১০৪ বছর বয়সী এ প্রবীণ আলেম ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। ফলে প্রায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়। গত কয়েক মাসে শরীরে নানা জটিলতা দেখা দিলে একাধিকবার চট্টগ্রাম ও ঢাকার হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে হয় বড় হুজুরখ্যাত আল্লামা শফীকে।


আল্লামা শফী দীর্ঘদিন ধরে ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ও শ্বাসকষ্টসহ নানা বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার‌ আল-জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার মহাপ‌রিচাল‌কের পদ থে‌কে পদত্যাগ করেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী। এরপর অসুস্থ আহমদ শফীকে বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে চট্টগ্রাম হাসপাতালে নেয়া হয়।


সেখানে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের আইসিইউতে থাকা আল্লামা শফীকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে শুক্রবার সন্ধ্যার আগে ঢাকায় এনে আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সন্ধ্যায় সেখানেই শিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

পটিয়া উপজেলা মেম্বার সমিতি গঠিতঃ শহীদুল ইসলাম সভাপতি ও সৈয়দ জাবেদ সরোয়ার সাধারণ সম্পাদক

পটিয়া উপজেলা মেম্বার সমিতি গঠিতঃ শহীদুল ইসলাম সভাপতি ও সৈয়দ জাবেদ সরোয়ার সাধারণ সম্পাদক

   



সেলিম চৌধুরী পটিয়া প্রতিনিধিঃ  চট্টগ্রামের  পটিয়া উপজেলা মেম্বার সমিতি গঠন করা হয়েছে এতে সভাপতি     


শহীদুল ইসলাম জুলু,  সৈয়দ জাবেদ সরোয়ার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়।   


বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নকে আরো তরান্বিত এবং জনগনের কাছে পৌঁছে দিতে মহান জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী এমপি’র নির্দেশ ও সুপারিশক্রমে পটিয়া উপজেলা মেম্বার সমিতি সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির সকল সদস্যের সিদ্ধান্ত মোতাবেক শহীদুল ইসলাম জুলুকে (হাইদগাঁও) সভাপতি ও সৈয়দ জাবেদ সরোয়ারকে (বড়লিয়া) সাধারণ সম্পাদক করে আংশিক কমিটি গঠন করা হয়।


উক্ত কমিটিতে  সহ-সভাপতি শাহ আলম,  সহ-সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সবুজ (জঙ্গল খাইন)সহ-সভাপতি শীতল তালুকদার (কাশিয়াইশ) সহ-সভাপতি আহম্মদ নুর (আশিয়া) সহ-সভাপতি হাজ্বী আলম (কুসুম পুরা) যুগ্ন সম্পাদক নজরুল ইসলাম সালমান (শোভনদন্ডী) যুগ্ন-সম্পাদক -মোঃ হাসান (জিরি)সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জসীম উদ্দীন(ভাটি খাইন) সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল ইসলাম (হাবিলাস দ্বীপ) দপ্তর সম্পাদক আবু তালেব (ছনহরা) অর্থ-সম্পাদক টিটু দেব (হাইদগাঁও) প্রচার সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দীক (কোলাগাঁও) সহ-প্রচার গোপন দাশ (ভাটি খাইন)ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ আনোয়ার (কচুয়াই)ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক জেবল হোসেন (জিরি) বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রতন সেন (খরনা)মহিলা সম্পাদিকা জেসমিন আক্তার (ধলঘাট)সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ফরিদা পারভিন (কুসুমপুরা) তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শম্ভু দে (কেলিশহর)।


সিনিয়র সদস্য রফিকুল ইসলাম (জঙ্গল খাইন) সদস্য যথাক্রমে জাহাঙ্গীর মুন্সী (ভাটি খাইন) মোঃ সাইফুদ্দীন আহমদ (বড়লিয়া)তসলিমা নুর(হাইদগাঁও) নাসিমা আক্তার (শোভনদন্ডী) রত্না নন্দী (কাশিয়াইশ)


মিনি শীল (ভাটিখাইন) মোঃ কামাল উদ্দীন (জিরি) লাকী দাশ (খরনা) সেলিনা আক্তার (কচুয়াই)মোঃ লোকমান (ধলঘাট)


শ্রীধর মজুন্দার (হাবিলাস দ্বীপ) ও কহিনুর আক্তার (ছনহরা)।


অতি দ্রুত সময়ে পটিয়া উপজেলা মেম্বার সমিতির কার্যকরী সভা ডেকে আলোচনা সাপেক্ষে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে।

আল্লামা শাহ আহমদ শফী'র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন, কুয়েত শাখার শোক প্রকাশ

আল্লামা শাহ আহমদ শফী'র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন, কুয়েত শাখার শোক প্রকাশ




প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ  উপমহাদেশের বিখ্যাত আলেমে দ্বীন,  বাংলাদেশের কওমি মাদ্রাসা সমূহের শীর্ষ সংগঠন আল হাইয়াতুল উলিয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া এর চেয়ারম্যান, বেফাকুল মাদারিস, বাংলাদেশের চেয়ারম্যান, আল-জামিয়াতুল আহলিয়া মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী,  চট্টগ্রাম মাদ্রাসার সম্মানিত মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফী আজ বিকেলে  রাজধানী ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বার্ধক্যজনিত কারণে ইন্তেকাল করেছেন। 

(( ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন ))

বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় এ আলেমে-দ্বীন এর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছি। 

 

শোক বার্তায় বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন কুয়েত পক্ষথেকে  বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

দাইয়ানুর রহমান (মিষ্টারনুর)

সাধারণ সম্পাদক

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন, কুয়েত শাখা।

গফরগাঁও হেল্পলাইন ২৪” এর ১৩ হাজার মেম্বার পূর্তি অনুষ্ঠান উদযাপন

গফরগাঁও হেল্পলাইন ২৪” এর ১৩ হাজার মেম্বার পূর্তি অনুষ্ঠান উদযাপন




আশিকুজ্জামান মিজান ময়মনসিংহ প্রতিনিধি


 ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও থানার বেশ কয়েকজন যুবকের সমন্বয়ে গড়ে উঠেছিল ‘গফরগাঁও হেল্পলাইন ২৪’ নামের একটি ফেসবুক গ্রুপ। যা আজ ১৩ হাজার এর উপরের সদস্যের একটি পরিবারে পরিণত হয়েছে। সে উপলক্ষে আজ শুক্রবার বিকেলে একটি সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম এর আয়োজন করে সংগঠনটি।

উক্ত প্রোগ্রামে উপস্থিত ছিলেন প্রতিদিনের বাংলাদেশ পত্রিকার সম্পাদক জনাব মাজহারুল হক। তিনি বলেন গফরগাঁয়ের প্রেক্ষাপটে এটি একটি ভালো উদ্যোগ আমার বিশ্বাস এই সংগঠনটি ভবিষ্যতে আরো সামনে অগ্রসর হবে।

এই প্রোগ্রামে উৎসাহ প্রদান করতে উপস্থিত ছিলেন জনি মোবাইল কর্নার এন্ড ইলেকট্রনিক্স এর স্বত্বাধিকারী শাহরিয়ার জনি, তিনি বলেন ‘গফরগাঁও হেল্পলাইন ২৪’ এর কার্যক্রমে আমি মুগ্ধ। আমি চাই তারা তাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত রাখুক। তিনি আরো বলেন এই গ্রুপ কে উৎসাহ প্রদানের স্বার্থে আমার জনি মোবাইল কর্নার এন্ড ইলেকট্রনিক্স এর পক্ষ থেকে সকল মেম্বারদের জন্য রয়েছে আকর্ষণীয় ছাড়ের ব্যবস্থা।

উক্ত ফেসবুক গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা আনোয়ারুল কবির মামুন বলেন, আমরা এই গ্রুপের মানুষের সার্বিক সহযোগিতার জন্য খুলেছি আমার বিশ্বাস এর মাধ্যমে গফরগাঁওয়ের মানুষ তথ্য সেবায় অনেক দূর এগিয়ে যাবে। উক্ত গ্রুপের এডমিন মেহেদী হাসান বুলবুল বলেন, আমরা সবাই গফরগাঁও বাসীর অনুপ্রেরনা পেয়ে সত্যি খুবই আনন্দিত, তাই আমাদের তথ্য সেবার দায়বদ্ধতা অনেক বেড়ে গেছে।

এই অনুষ্ঠানে এই গ্রুপের সকল এডমিন মডারেটর সদস্য শুভাকাঙ্ক্ষী সহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

গফরগাঁও হেল্প লাইন এর সমন্বয়ক মাহমুদুল হাসান সজল বলেন, আমরা অল্প সময়ে আল্লাহর রহমতে অনেক মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিতে পেরেছি। আমরা আপনাদের সব সময় সেবা দেয়ার চেষ্টা করেছি এবং আগামীতেও এই চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। আমরা সবার নিকট দোয়া প্রার্থী।