একাত্তর টিভির বিরুদ্ধে দেয়া নুরের বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান

একাত্তর টিভির বিরুদ্ধে দেয়া নুরের বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান

মিঠুন কুমার রাজ, স্টাফ রিপোর্টারঃ 

একাত্তর টিভির বিরুদ্ধে দেয়া নুরের বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান।

একাত্তর টেলিভিশনের বিরুদ্ধে দেয়া নুরের বক্তব্য প্রত্যাহারের আহবান জানিয়েছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিউজে)। বুধবার (১৪ অক্টোবর) সংগঠনটির নেতারা বলেন, প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাইলে, নুরকে গণমাধ্যমের শত্রু হিসেবে চিহ্নিত করা হবে।

বুধবার (১৪ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে ডিউজে সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ ও সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু বলেন, কোনও টেলিভিশনের টকশো নুর প্রত্যাখ্যান করতেই পারেন। তবে সেই টেলিভিশনকে বয়কট করতে সামাজিক মাধ্যমে যেভাবে নোংরা তৎপরতা চালিয়েছেন তা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এমনকি একাত্তর টিভির ফোন নম্বর ফেসবুকে শেয়ার করেও তিনি গর্হিত অপরাধ করেছেন। এই ঘটনায় স্বাধীন গণমাধ্যমের জন্য নুর হুমকি হিসেবে চিহ্নিত হচ্ছেন বলে দাবি করেন নেতারা।

চলাচলেরর রাস্তার বিরোধ নিরসন করে চমক দেখালেন কাউন্সিলর মন্নান

 চলাচলেরর রাস্তার বিরোধ  নিরসন করে চমক দেখালেন  কাউন্সিলর মন্নান


সেলিম চৌধুরী স্টাফ রিপোর্টারঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভার ৮ নম্বর ওর্য়াডের আজিজুর রহমান সওদাগর  বাড়ীর দীর্ঘদিনের বিরোধ নিরসন করে নিরসন করে চমক দেখালেন পটিয়া পৌরসভার ৮ নং কাউন্সিলর এম. এ মন্নান। সুএে জানাযায়,   মরহুম আজিজুর রহমান সওঃ এর বাড়ীর দীর্ঘদিনের চলাচলের রাস্তা নিয়ে বিরোধ সমাধান করে করে দিয়েছেন বুধবার   বৈঠক বসে। ৮ নং ওর্য়াড হতে তিনতিনবার নির্বাচিত সফল পৌর কাউন্সিলর ও ওর্য়াড আওয়ামীলীগের সাবেক সফল সভাপতি এম এ মন্নান।  আজিজুর রহমান সওঃ বাড়ীর চলাচলের রাস্তা নিয়ে প্রতিবেশিদের সাথে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিলো পটিয়া পৌরসভার পক্ষ হতে কাউন্সিলরের উদ্যোগে এ বাড়ীর রাস্তাটি উন্নয়ন ও সমস্যা সমাধানের জন্য বুধবার এক মতবিনিময়ের আয়োজন করে সকল সমস্যার নিরসন করে এলাকায় চমক সৃষ্টি করেন অনেক দিনের বিরোধ সমাধান হওয়ায় এলাকাবাসী কাউন্সিলর এম এ মন্নানকে অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আগামীতে এলাকার মানুষের উন্নয়নে  আবারও কাউন্সিলর পদে এম এ মন্নানকে নির্বাচিত করার আহবান জানান।এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট 


 ব্যাবসায়ী মুসা সওদাগর,হাজী আহমদ নবী, বদিউল আলম, টিপু সুলতান, শফি সওঃ, মোহাম্মদ ইউনুস,সাইফুল ইসলাম,মনসুর,মোঃ জুবাইর, আবদুর সত্তারসহ গন্যমান্য ব্যক্তি বর্গ।

তেঁতুলিয়ায় সরকারি ভবনে চুরি করতে গিয়ে ভ্রাম্যমান আদালতে যুবকের কারাদন্ড

তেঁতুলিয়ায় সরকারি ভবনে চুরি করতে গিয়ে ভ্রাম্যমান আদালতে যুবকের কারাদন্ড


মোঃ রকি, পঞ্চগড় (তেঁতুলিয়া)  প্রতিনিধিঃতেঁতুলিয়ায় উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরের সরকারি বাসভবনে চুরি করতে গিয়ে জসিম উদ্দীন (৩৬) নামের এক যুবককে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

আজ বুধবার (১৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় তেঁতুলিয়া উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে অবস্থিত জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের আবাসিক বাসভবনে চুরি উদ্দেশ্যে অনুপ্রবেশের সময় লোকজন টের পেলে পালানোর সময় জসিমকে হাতেনাতে আটক করে স্থানীয় লোকজন। 

দন্ডপ্রাপ্ত জসিম উদ্দীন পঞ্চগড়ের সদর উপজেলার ভিতরগড় এলাকার আমবাড়ি গ্রামের জাহের আলী খাঁ'র পুত্র।

তাৎক্ষনিক খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তেঁতুলিয়া উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মো. মাসুদুল হক ভ্রাম্যমান আদালতে জসিমকে দন্ডবিধি, ১৮৬০ এর ৩৫৬ ধারায় এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদে উপ নির্বাচনে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে রাজীব রায়

বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদে উপ নির্বাচনে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে রাজীব রায়

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদে উপ নির্বাচনে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে আছেন, বাঘারপাড়া উপজেলা যুবলীগের বিপ্লবী আহ্বায়ক বাবু রাজীব রায়। ইতিমধ্যে তিনি হাজার হাজার নেতা কর্মি নিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল পালন করেন।সেদিন হাজার হাজার নেতা কর্মির ভালোবাসায় সিক্ত ছিলেন তিনি। জানা যায়, তিনি বাঘারপাড়া উপজেলা আওয়ামী,যুবলীগ,স্বেচ্ছাসেবকলীগ,

কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ ও ছাত্রলীগের প্রত্যেক নেতা কর্মিদের, সবসময় বিপদ আপদে পাশে থাকেন তিনি। এবং প্রত্যন্ত গ্রাম গঞ্জের মানুষ সবাই তাকে একনামেই চেনে আমাদের রাজীব দা,তারা বলেন, তিনি (রাজীব)ই তাদের সবসময় খোজ খবর নেন তিনি, চেয়ারম্যান হিসেবে যোগ্য প্রার্থী। উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের এক নেতা বলেন, রাজীব দাদা আছে বলেই আজ বাঘারপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ চাঙ্গা আছে। তিনি একমাত্র আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীর খোজ খবর রাখেন। তিনি একমাত্র উপজেলায় চেয়্যারমান হিসেবে যোগ্য। আমরা রাজীব দাকেই নৌকার মাঝি হিসেবে দেখতে চাই। এছাড়াও উপজেলা আওয়ামীলীগের এক নেতা বলে, রাজীব রায়কে মনোনয়ন দিলে নৌকার বীজয় সুনিশ্চিত। সকলের একটাই দাবি রাজীব রায়কেই নৌকার মাঝি হিসেবে দেখতে চাই।

জমি আছে ঘর নাই প্রকল্পের আওতায় ঘর পেলেন জয়নাল খাঁ

জমি আছে ঘর নাই প্রকল্পের আওতায় ঘর পেলেন জয়নাল খাঁ


আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের সদর উপজেলার লেবুতলা গ্রামের বাসিন্দা হলেন জয়নাল খাঁ (৭৫) স্ত্রী, ৪ ছেলে-মেয়েকে নিয়ে বাবার সম্পত্তি সূত্রে পাওয়া ৫ কাঠা জমির উপর, জরাজীর্ণ একটি মাটির ঘরেই কাটিয়েছেন জীবনের বেশির ভাগ সময়। মাটির ঘরের খড়ের ছাউনির ছিদ্র দিয়ে বর্ষায় পানি এবং শীতে হিমেল হওয়া ঢুকতো। জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে শেষ ইচ্ছা ছিল ভালো ঘরে শুয়ে মারা যাওয়ার। এখন জয়নাল খাঁ’র সেই ইচ্ছা পূরণের সাথে দুর্ভোগও কমেছে কিছুটা।

গত মাসে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে ‘জমি আছে ঘর নাই’ প্রকল্পের আওতায় দুর্যোগ সহনীয় বাড়ি পেয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার ১৩ অক্টোবর ২০২০ আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবসের অনুষ্ঠানে, গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সারাদেশে ১৭ হাজার ৫টি ‘দুর্যোগ সহনীয় বাড়ির’ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর পরেই আনুষ্ঠানিকভাবে জয়নাল খাঁকে বাড়ির চাবি বুঝিয়ে দিয়েছেন, জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ কর্মকর্তা। এখন সেই বাড়িতেই নিশ্চিন্তে বসবাস করার স্বপ্ন দেখছেন তিনি।

দুর্যোগ সহনীয় বাড়ি পেয়ে খুশি জয়নাল খাঁ। তিনি জানান, পরের কৃষি জমিতে কাজ করেই সংসার চালাতেন, দীর্ঘদিন ধরে স্ট্রোক প্যারালাইজডসহ নানা রোগে আক্রান্ত তিনি। এ অবস্থায় মাটির ঘরে পরিবারের অন্য সদস্যদের নিয়ে, কষ্টের মাঝে বসবাস করতেন। এখন সরকার থেকে একটি পাকা ঘর পেয়েছেন তিনি।তিনি বলেন, ইটের ঘর পাব তা স্বপ্নেও ভাবিনি। এখন শান্তি মতো ঘুমাতে পারব। দোয়া করি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেন সুস্থভাবে আরও অনেকদিন বেঁচে থাকেন।শুধু জয়নাল খাঁ নয়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে তার মতো যশোর জেলার ৮টি উপজেলার অসচ্ছল, হত দরিদ্র, গৃহহীন পরিবার, বিধবা, প্রতিবন্ধী নারী-পুরুষ ২১২টি আধাপাকা বাড়ি পেয়েছেন। ২০১৯-২০ অর্থবছরে জেলার ২১২টি পরিবারকে এই কর্মসূচির আওতায়, দুর্যোগ সহনীয় বাড়ি দিয়েছে সরকার এমন বাড়ি পেয়ে খুশি তারা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে, ধন্যবাদ জানিয়েছেন অসহায় এসব ভুক্তভোগীরা। তবে চাহিদার তুলনায় বাড়ি অপ্রতুল বলে জানিয়েছেন অনেকেই।


জেলা দুর্যোগ ও ত্রাণ কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানা গেছে, ৪০০ বর্গফুটের উপর বাড়িগুলো পাঁচ ইঞ্চি ইটের গাঁথুনি দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে। ২ কক্ষের প্রতিটির দৈর্ঘ্য ১০ ফুট ও প্রস্থ ১০ ফুট। প্রতিটি ঘরে দুটি করে লোহার বা কাঠের দরজা-জানালা, অত্যাধুনিক রঙিন টিনের ছাউনি, বারান্দা, একটি রান্নাঘর, রান্না ঘরে যাওয়ার করিডোর ও স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটারি বাতরুম রয়েছে। এসব বাড়ি বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, বজ্রপাত প্রতিরোধে সক্ষম। ২১২টি পরিবারের প্রতিটি বাড়ি নির্মাণে ২ লাখ ৯৯ হাজার ৮৬০ টাকা খরচ হয়েছে। যা মোট ব্যয় হয়েছে ৬ কোট ৩২ লাখ ৭০ হাজার ৪৬০ টাকা।এ বিষয়ে যশোর জেলা দুর্যোগ ও ত্রাণ কর্মকর্তা হায়দার আলী জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটা বিশেষ উদ্যোগ হলো দেশের কোনো মানুষ যেন বাস্তুহারা না থাকে, সেই লক্ষ্যে কাজ করছেন সরকার। স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটারি বাতরুম ও রান্নাঘর সুবিধাসহ এসব বাড়ি বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, বজ্রপাত প্রতিরোধে সক্ষম। ইতোমধ্যে ২১২টি বাড়িই সুবিধাভোগীদের হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে। এই প্রকল্পের আওতায় আরও বাড়ি নির্মাণ করে দেয়ার কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান বলেন, ‘জমি আছে ঘর নাই’ প্রকল্পের আওতায় গৃহহীনদের বাড়ি দেয়া হচ্ছে, যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভিনব ও চমৎকার উদ্যোগ। বাড়িগুলো পেয়ে হতদরিদ্ররা এতো খুশি হয়েছেন, যে তারা হাত তুলে প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া করেছেন। আমরা সফলভাবে বাড়িগুলো তৈরি করতে পেরেছি। এতে করে গ্রামের পিছিয়ে পড়া মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন ও জীবনযাত্রার পরিবর্তন হবে।তিনি আরও বলেন, তবে চাহিদার তুলনায় তা অপ্রতুল। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

দলগাছীতে স্মার্টফোন কেনার টাকা কে কেন্দ্র করে বিষ পানে এক কিশোরের মৃত্যু

দলগাছীতে স্মার্টফোন কেনার টাকা কে কেন্দ্র  করে বিষ পানে  এক কিশোরের মৃত্যু

 

রহমতউল্লাহ বদলগাছী,নওগাঁঃনওগাঁ জেলা বদলগাছীতে  স্মার্টফোন কেনার টাকা কে কেন্দ্র করে  বিষপানে এক কিশোরের অকাল মৃত্যু্!১৪ ই অক্টোবর  বদলগাছী উপজেলার ০২ নং মথরাপুর ইউনিয়নের ০৬ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর সাদিপুর গ্রামের শ্রী দুলাল এর পুত্র স্ত্রী সাগর (১৭) নামে এক কিশোর বিষপানে মৃত্যুবরণ করেন !

 এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় মৃত কিশোর স্মার্টফোন   কেনার টাকা কে কেন্দ্র করে পরিবারের সাথে মনমালিন্যের কারণে বিষ পান করেন ।দুই মেয়ে এক ছেলে নিয়ে শ্রী দুলাল ও শ্রীমতি সাথী  রানী এর পরিবার।সাম্প্রতিক পরিবারের কিছু অভাব-অনটনের ফলে ছেলের আবদার কৃত স্মার্ট ফোন কেনার  টাকা না দেওয়ায় !তাদের সাংসারিক কাজের সম্বল কৃষি, সামনে আলুর মৌসুম   কে কেন্দ্র করে হিমাগারে আলু নেওয়ার জন্য শ্রী সাগরকে পাঠানো হলে সে  আলু তুলতে গিয়ে তাদের রাখা  কিছু আলু বিক্রয় করায় তার বাবার কাছে  কিছু বকা খাওয়ায় রাগান্বিত অবস্থায় বিষপানে মৃত্যুবরণ করেন ।এ বিষয়ে বদলগাছি থানায় জানানো হয়েছে । এ ঘটনায় বদলগাছী থানার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

নন্দীগ্রামে ১০ কিলোমিটার যানজট

 নন্দীগ্রামে ১০ কিলোমিটার যানজট


আব্দুল আহাদ,নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃবগুড়ার নন্দীগ্রামে উপজেলায় বগুড়া-নাটোর মহাসড়কে বালু বোঝাই দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে অন্তত ১০ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় হেলপার ও চালক গুরত্বর আহত হয়েছেন।বুধবার ভোর রাতে নন্দীগ্রামের বগুড়া-নাটোর মহাসড়কের ওমরপুর এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নন্দীগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা রতন দেবনাথ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।জানা গেছে, বুধবার ভোর রাতে ওমরপুর এলাকায় বালু বোঝাই (ঝিনাইদহ ট-১১-১৭৩৪) ট্রাকের সাথে বগুড়া গামী সার বোঝাই (ঢাকা মেট্টো ট-১৮-৮৫০১) ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এ সময় বালু বোঝাই ট্রাকের হেলপার ও চালক গুরত্বর আহত হয়। তবে আহতের পরিচয় পাওয়া যায়নি। তাদের বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর ট্রাকের হেলপার ও চালক পালিয়ে গেছে।

যার ফলে বগুড়া-নাটোর মহাসড়কের নন্দীগ্রাম রণবাঘা সীমান্ত থেকে কাথম বেরাগাড়ী পর্যন্ত দুই দিকে অন্তত ১০ কিলোমিটার ভয়াবহ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে যানজটে আটকা পড়ে যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। এতে বেশি দুর্ভোগে পড়েছেন নারী ও শিশুরা। এছাড়া ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে আটকা পড়ে পণ্যবাহী চালকদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়।এ বিষয়ে কুন্দারহাট হাইওয়ে থানার ইনচার্জ (ওসি) সাইফুল ইসলাম বলেন, দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে কারণে যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে যানজট নিরসনে পুলিশ কাজ করছে।

মুজিব শতবার্ষিকী উপলক্ষে তালবীজ রোপণ কর্মসূচি পালিত

মুজিব শতবার্ষিকী উপলক্ষে তালবীজ রোপণ কর্মসূচি পালিত


খাদেমুল ইসলাম রাজ,বীরগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধিঃআজ বুধবার বিকেল ৫ টায় বীরগঞ্জ উপজেলার ২ নং পলাশবাড়ী ইউনিয়নে ৫০০ টি তাল বীজ রোপন করেন, একতাই বল বেতার শ্রোতাক্লাব, হাজীপাড়া পলাশবাড়ী বীরগঞ্জ দিনাজপুর,স্থান ব্রাহ্মণভিটা উচ্চ বিদ্যালয়।অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ক্লাবের সভাপতি, জনাব মোঃ ইউনুস আলী, সভাপতি একতাই বল বেতার, শ্রোতাক্লাব।অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে, বাংলাদেশ বেতার, ঠাকুরগাঁও কেন্দ্রের আয়োজনে বেতার ক্যাম্পেইন)  বীরগঞ্জ অঞ্চলের বেতার শ্রোতাক্লাবদের  সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকদের নিয়ে বেতার কতৃপক্ষ, বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস উপলক্ষে   সাবান বিতরণ করেন এবং সাবানের সাথে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সহ হাত ধোয়ার নিয়ম শিখানো হয়, এবং এ অঞ্চলের বেতার শ্রোতাক্লাবদের সাথে বেতার অনুষ্ঠান নিয়ে আলোচনা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, জনাব মোঃ আব্দুর রহিম, আঞ্চলিক পরিচালক, বাংলাদেশ বেতার, ঠাকুরগাঁও।গেস্ট অব অনার : জনাব মোঃ জাইফুল ইসলাম আকন্দ, আঞ্চলিক প্রকৌশলী বাংলাদেশ বেতার, ঠাকুরগাঁও।বিশেষ অতিথি  ড. মোঃ সোলায়মান আলী, প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ, বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. সিরাজুল ইসলাম কলেজ, বোদা, পঞ্চগড়। মোঃ মোস্তাক আহমদ, উপস্থাপক, বাংলাদেশ বেতার,ঠাকুরগাঁও মোঃ ইব্রাহীম শাহ্ , সাধারন সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, পলাশবাড়ী ইউনিয়ন শাখা, বীরগঞ্জ দিনাজপুর। মোঃ হেলাল শাহ্ প্রধান শিক্ষক, ব্রাহ্মণভিটা উচ্চ বিদ্যালয়।  মোঃ মাহাবুবুল হক, প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর, ইএসডিও প্রোমোট।মোঃ ইউনুস আলী, সভাপতি, একতাই বল বেতার শ্রোতাক্লাব হাজীপাড়া পলাশবাড়ী বীরগঞ্জ দিনাজপুর।

সিরাজগঞ্জে ১ হাজার পিচ ইয়াবা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক

সিরাজগঞ্জে ১ হাজার পিচ ইয়াবা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক


মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি পুলিশ) এর অভিযানে ১ হাজার পিস ইয়াবাসহ মো: শাহ্ জাহান (২২) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে। আটককৃত মো: শাহ্ জাহান কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার ঝিমং খালী গ্রামের মো. আবুর কাশেমের পুত্র।

আজ বুধবার (১৪ অক্টোবর) বিকাল ৩টার সময় এই তথ্য নিশ্চিত করে সিরাজগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি পুলিশ ওসি) মো: মিজানুর রহমান বলেন, পুলিশ সুপার হাসিবুর আলম বিপিএম এর দিকনিদের্শনায় এসআই মো: নাজমুল হকসহ সঙ্গীয় অফিসার-ফোর্স এর সহায়তায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) গভীর রাতে সদর উপজেলার বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানাধীন কড্ডার মোড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ মো. শাহ্ জাহান (২২) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। এই বিষয়ে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নাটোর ফুলবাড়ীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ১ জনের মৃত্যু

 নাটোর ফুলবাড়ীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ১ জনের মৃত্যু


রাজশাহী ব্যুরোঃ নাটোর লালপুর উপজেলার ফুলবাড়ি মোড়ে ট্রাকচাপায় এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে।জানাযায় মৃতব্যক্তি ফুলবাড়ি গ্রামের মৃত বিজন মণ্ডলের ছেলে এবং আলাউদ্দিন মেম্বার এর পিতা মুনসাদ মন্ডল ৭০৷ প্রত্যক্ষদর্শী ও ওয়ালিয়া পুলিশ ফাঁড়ি সূত্রে জানা যায়, বুধবার ১৪ অক্টোবর বিকাল সাড়ে ৪ টার সময়  মুনসাদ মন্ডল নিজ বাড়ি থেকে সাইকেলযোগে ওয়ালিয়া বাজার যাওয়ার সময় রাস্তায় ঘাতক ট্রাক পেছন থেকে এসে চাপা দেয়, ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন। 

এ বিষয়ে ওয়লিয়া পুলিশ ফাঁড়ি উপ-পরিদর্শক কৃষ্ণ মোহন সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান৷  এলাকাবাসীর সহযোগিতায় ঘাতক ট্রাকটিকে আটক করা  হলেও পালিয়ে গেছে ড্রাইভার।

পূর্ব শত্রুতার জেরে একই পরিবারের ৫ জন জখম

পূর্ব শত্রুতার জেরে একই পরিবারের ৫ জন জখম




আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধিঃআশাশুনির পুইজালায় পূর্ব শত্রুতা নিয়ে বড়ভাইসহ তার লোকজনের বেপোরোয়া মারপিটে বৃদ্ধামা, ছোটভাই ,স্ত্রী ও শিশুপুত্রসহ একই পরিবারের ৫ জন জখম হয়েছে। জখমিদের মধ্যে মা ও ছেলের অবস্থা আশঙ্খাজনক। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বিকালে উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নের পুইজালা গ্রামে। এ ব্যাপারে থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে জানা গেছে পুইজালা গ্রামের মৃত গফুর হালদার এর পুত্র মফিজুল ইসলামের সাথে তার আপন ভ্রাতা হাবিবুর রহমান বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত শত্রুতা সৃষ্টি করে হয়রানি ও ক্ষয়ক্ষতি করে আসছে। এ নিয়ে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে কয়েকদিন আগে হাতাহাতি হয়। এ বিষয় ভাই হাবিবুর রহমান বাদী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ উভয় পক্ষকে থানায় হাজির হওয়ার জন্য বললে বিবাদী ভাই মফিজুল ইসলাম থানায় হাজির হলেও অভিযোগের বাদী তার ভাই হাবিবুর রহমান থানায় হাজির হয়নি। ফলে বিবাদীকে পুলিশ বাড়ীতে যেতে বললে সে বাড়ীতে ফিরে আসে। পথি মধ্যে তার ভাই হাবিবুর রহমানের সাথে দেখা হলে মফিজুল বলে ভাই এভাবে দীর্ঘদিন যাবৎ কত মিথ্যা অভিযোগ করবি এ কথা বলায় ক্ষিপ্ত হয়ে এক পর্যায় লাঠিসোটা,লোহার রড নিয়ে সজ্জিত হয়ে পুইজালা গ্রামের মেছের আলীর পুত্র রেজাউল করিমের নির্দেশে এলাকার ত্রাশ,শান্তি শৃঙ্খলা ভঙ্গকারী বড়ভাই হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে তার পুত্র মামুনুর রহমান মৃত মোস্তফার পুত্র ফারুক হোসেনসহ তাদের লোকজন ছোটভাই মফিজুল ইসলামের মারপিটের জন্য ধাওয়া কররে সে প্রাণ রক্ষায় দৌড়াইয়ে পালানোর চেষ্টাকালে পার্শ্ববর্তী জনৈক নজরুল সানার মৎস্য ঘেরের মধ্যে পড়ে গেলে তাকে এলাপাতাড়ীভাবে পেড়াতে ও কোপাতে থাকে সে বঁাচাও বঁাচাও বলে চিৎকার করলে তার বৃদ্ধ মাতা জহুুরা খাতুন (৭০), স্ত্রী হোসনে আরা খাতুন (৩০) ও  বড় পুত্র জালাল হোসেন দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে তাকে বঁাচানোর চেষ্টা করলে তাদেরকেও এলোপাতাড়ীভাবে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এ নিষ্ঠুর বর্বরতা থেকে রেহাই পাইনি তার দেড় বছরের শিশু পুত্র মাহিম হোসেন। এ সময় মারপিটকারীরা মফিজুলের পকেটে থাকা ২হাজার ৭শত টাকা কেড়ে নেওয়াসহ জখমীদের জামাকাপড় ছিড়েছুটে ২হাজার টাকা ক্ষতি করে। এরপর হামলাকারীরা মফিজুলের বসত বাড়ীতে ঢুকে সংসারের প্রয়োজনীয় আসবাব পত্র ও ঘরের জানালা ভাংচুর করে ক্ষতি সাধন করে।   পার্শ্ববর্তি লোকজন জখমীদের উদ্ধার করে আশাশুনি হাসপাতালে ভর্তি করে।  আহতদের মধ্যে বৃদ্ধামাতা জোহরা খাতুন ও ছোটভাই মফিজুলের অবস্থা আশাংকাজনক অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্চা লড়ছে। এ ব্যাপারে বড়ভাই হাবিবুর রহমানসহ ৫জনকে আসামী করে ছোট ভাই মফিজুল ইসলাম বাদী হয়ে আশাশুনি থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিলো। আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করে জঘন্ন মারপিটের ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

পটিয়ায় দোকান থেকে উচ্ছেদ করতে একজনকে হত্যার হুমকি

পটিয়ায় দোকান থেকে উচ্ছেদ করতে একজনকে হত্যার হুমকি


পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া পৌর সদরে আদালত রোড়ে শহীদ মিনারের সামনে পটিয়া সুপার মার্কেটে রাজস্থান কাপড়ের দোকানের মালিক মোঃ সোহেলকে দোকান থেকে উচ্ছেদ করতে হত্যার হুমকি দিয়েছে মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় উপজেলার পুর্ব কোলাগাঁও আহমদ ফকির বাড়ির মৃত মো মুছার ছেলে মোঃ সোহেল বাদী হয়ে ইমরান খান, মর্তুজা বেগম, সাং পটিয়া পৌরসভার ৪নং  ওয়ার্ড শেয়ান পাড়াসহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে পটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। থানার দায়েরকৃত অভিযোগ সুএে জানাযায়, দীর্ঘদিন যাবত সোহেল এর সাথে ইমরানের বিরোধ চলে আসছিল। গত ২০১৫ সালে মৌখিক চুক্তিতে ৮ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা সোহেল এর কাছ থেকে ইমরান গ্রহণ করে। পরে ইমরান তাহা অস্বীকার করেন। দোকানের মেয়াদ শেষ হলে দোকানের জমিদার আবু তাহের মোঃ সোহেল এর কাছে রাজস্থান দোকান লাগিয়ত করেন। ইমরান ৮ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা প্রতারণা করে আত্মসাৎ করেন। বর্তমানে এ দোকান থেকে উচ্ছেদ করতে ০১/০৭/২০ ইং এবং চলতি মাসের ১৩ অক্টোবর সন্ধায় দুইদফা হত্যার হুমকি ধামকি দিচ্ছেন দোকানটি ছেড়ে দেওয়ার জন্য। বিষয়টি সত্যতা নিশ্চিত করেন অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা এস আই মেহরাজ ও দোকানের জমিদার আবু তাহের। আবু তাহের জানান দোকানটি ইমরানের কাছে গত ৬ বছর আগে লাগিয়ত করেছিলাম ইমরান উপভাডাটিয়া সোহেল কাছে মুখিক সাড়ে ৮ লাখ টাকায় লাগিয়ত করে। দোকানের মেয়াদ শেষ হলে মোঃ সোহেল কাছে লাগিয়ত করি। কিন্তু  ইমরান সোহেল এর সাড়ে ৮ লাখ টাকা না দিতে সোহেলকে হত্যার হুমকি ধামকি এবং দোকান থেকে উচ্ছেদ করতে পায়তারা চালাচ্ছে মর্মে জমিদার আবু তাহের এর কাছে অভিযোগ করেন সোহেল। সে এব্যাপারে স্থানীয় ব্যানসায়ি ও পটিয়া থানার পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।  মোঃ সোহেল সওঃ জানান দীর্ঘদিন যাবত আমিজ ইমরান ব্যাবসা করে আসছিলা তার টাকার প্রয়োজন হলে ২০১৫ সালের দোকানটি সাড়ে ৮ লক্ষ টাকা দিয়ে লাগিয়ত করে। কিন্তু ইমরান এ টাকা না দিতে এবং বর্তমান আমার দোকান থেকে উচ্ছেদ করতে নানান ধরনের হয়রানি হুমকি ধামকি দিচ্ছে। এ ব্যাপারে আমি পটিয়া থানায় ২ টি অভিযোগ দায়ের করেছে বলে জানান।                                     

আশাশুনিতে স্কুলের ছাদ ঢালাই কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন ইউএনও

আশাশুনিতে স্কুলের ছাদ ঢালাই কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন ইউএনও


আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধিঃআশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউলিয়নের ফকরাবাদ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতল ভবনের ছাদ ঢালাই কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা। বুধবার বিকালে তিনি এ ঢালাই কার্যক্রম পরিদর্শন ও তদারকি করেন। পরিদর্শনকালে উপজেলা প্রকৌশলী আক্তার হোসেন, ফকরাবাদ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মিতা রাণী মন্ডল, এসএমসি’র সভাপতি হিরনময় মন্ডল, সহকারি শিক্ষক সমীরন কান্তি মন্ডলসহ শিক্ষক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শৈলকুপায় নানা আয়োজনে কবি গোলাম মোস্তফার ৫৬ তম মৃত্যু বার্ষিক উদযাপন

 শৈলকুপায়  নানা  আয়োজনে  কবি গোলাম মোস্তফার ৫৬ তম মৃত্যু বার্ষিক  উদযাপন


সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃঝিনাইদহ জেলা শৈলকুপা উপজেলার কৃতি সন্তান মুসলিম বাঙ্গালী নবজাগরণের আলোকোজ্জল কবি গোলাম মোস্তফা  এর ৫৬ তম মৃত্যু বার্ষিকি উপলক্ষে ভাটই বাজারে কবি গোলাম  মোস্তফা ব্লাড ব্যাংক এর আয়োজনে আলোচনা সভা  ও দোয়া মাহফিলের  আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ১৪ নং দুধসর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জনাব সায়ুব আলী জোয়ার্দার। এই সময় উপস্থিত ছিলেন কবি গোলাম মোস্তফা ব্লাড ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা পলাশ সহ সকল সদস্য বৃন্দ।

পাটকেলঘাটায় ভ্রাম্যমান আদালতে মদপানের দায়ে অসিম সাধুকে ১ বছরের কারাদণ্ড

 পাটকেলঘাটায় ভ্রাম্যমান আদালতে মদপানের দায়ে অসিম সাধুকে ১ বছরের কারাদণ্ড

 

আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা জেলার পাটকেলঘাটায় মদপান করার অপরাধে অসিম সাধু (৩৮) নামের ব্যাক্তিকে, এক বছরের সাজা প্রদান করেছে  ভ্রাম্যমান আদালত।বুধবার (১৪ অক্টোবর) বিকালে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইকবাল হোসেন এ রায় প্রদান করেন।বখাটে অসিম সাধু উপজেলার তৈলকূপি গ্রামের মৃত: মনোঞ্জরন সাধুর ছেলে।সূত্র জানায়, অসিম সাধু বুধবার দুপুরে মদপান করে পাটকেলঘাটা বাজারের মাতলামি করেছিল।

এ সময় পুলিশ খবর পেয়ে তাকে আটক করে। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইকবাল হোসেন তাকে এক বছরের সাজা প্রদান করেন।পাটকেলঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ কাজী ওয়াহিদ মুর্শেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ঝিনাইদহে বিয়ের ১৬ দিনের মাথায় স্বামীর ২য় বিয়ে, ১ম স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

 ঝিনাইদহে বিয়ের ১৬ দিনের মাথায় স্বামীর ২য় বিয়ে,  ১ম স্ত্রীকে  হত্যার অভিযোগ




সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার চাঁদবা গ্রামের মেয়ে স্বর্ণালী। তিন মাস পূর্বে একই উপজেলার পাশ্ববর্তী গ্রাম আজমতনগরের আব্দুল মালেকের ছেলে সোহান প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে করে স্বর্ণালীর। বিয়ের ১৬ দিনের মাথায় একই উপজেলার কাঠালিয়া সুন্দরপুর গ্রামের নড়ু মিয়ার মেয়েকে ২য় বিয়ে করে সোহান। তার পর থেকে স্বর্ণালীর উপর যৌতুকের দাবিতে বিভিন্ন সময় নির্যাতন করে আসছিল সোহান ও তার পরিবার। গত ৫ অক্টোবর সকালে স্বর্ণালীকে তার স্বামী সোহান ও পরিবারের লোকজন নির্যাতন করে হত্যার পর মুখে বিষ ঢেলে হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়। পরে স্বর্ণালীর পরিবারের লোকজন লোকমুখে জানতে পেরে হাসপাতালে গিয়ে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। এ ঘটনায় নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ এনে ঝিনাইদহ বিঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা করেন স্বর্ণালীর পিতা তরিকুল ইসলাম। যার মামলা নং ২৬২/২০। তারিখ ১৩ অক্টোবর ২০২০ইং।

এ ব্যাপারে প্রতিবেশী লিমা খাতুন নামের এক মহিলা বলেন, স্বর্ণালীর মরদেহের ভিভিন্ন স্থান যেমন মুখে ও বাম হাতে সিগারেটের আগুনের ছ্যাকা দিয়া দাগ দেখতে পেয়েছেন। তাছাড়া তিনি হাসপাতালে গিয়ে মুখে বিষ দেখতে পান। কিন্তু জানতে পারেন তার ওয়াশ করার সময় কোন বিষ বের হয়নি এবং সেসময় তার মৃত্যু হয়। তাই তারা এই মৃত্যুর সঠিক তদন্ত করে বিচার দাবি করেন।

এ ঘটনায় স্থানীয় নুরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি বলেন, তিন মাস আগে প্রেমের ফাঁদে ফেলে স্বর্ণালীকে বিয়ে করার ১৬ দিনের মাথায় সোহান ২য় আরেকটি মেয়েকে বিয়ে করে। তারপর থেকে ওই পরিবারে অশান্তি সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে সে জানতে পারেন এই সোহান বিভিন্ন মেয়েকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারিত করে আসছে। তাই এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করছি।


স্বর্ণালীর পিতা তরিকুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, আমার মেয়ের মুখের বাম চলে ও বাম হাতে সিগারেটের আগুনের স্পষ্ট দাগ দেখতে পেয়েছি। যার ছবি আমি সংগ্রহ করে রেখেছি। আমার মেয়েকে নিয়ে যে ঘটনা ঘটিয়েছে সোহান ও তার পরিবার এর সঠিক তদন্ত করে শাস্তির জোর দাবি করছি। এছাড়াও আরো অভিযোগ করে তিনি বলেন, আমার মেয়েকে নিয়ে যে জঘন্য ঘটনা ঘটিয়েছে তা আর কোন পরিবারে যাতে না ঘটে বলে তিনি কেঁদে ফেলেন।

কোটচাঁদপুর কে এম এইচ কলেজে ভবন ধ্বসে শ্রমিকের মৃত্য

কোটচাঁদপুর কে এম এইচ কলেজে  ভবন ধ্বসে শ্রমিকের মৃত্য


ভবন ধ্বসে শ্রমিকের মৃত্যু  

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলায় আব্দুল মালেক শাহ্ (৪৫) নামে এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।  বুধবার সকালে কোটচাঁদপুর  সরকারি কেএম এইচ ডিগ্রি  কলেজে ভবন তৈরী তে নিম্ন মানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করায়  এ ঘটনা ঘটে। নিহত মালেক কুষ্টিয়া জেলার কালু শাহ'র ছেলে।  স্ত্রী সন্তান নিয়ে কোটচাঁদপুরের দুধসারা হঠাৎ পাড়ায় বসোবাস করতেন।প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, গত ৩ দিন আগে কোটচাঁদপুর সরকারি কেএমএইচ কলেজের টিচার কমন রুমের লিনটন ঢালাইয়ের কাজ শেষ করে।

বুধবার সকালে লিনটনের বাঁশ-কাঠ খুলতে যায়। এ সময় লিনটন ধ্বসে তার মাথার ওপর চাপা পড়ে। স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হলে তাকে যশোর আড়াইশবেডে হাসাপতালে ভর্তি করে। পরে সেখানে তার মৃত্যু হয়েছে বলে বিষয় টি নিস্তিত করেন কোটচাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনর্চাজ মোঃ মাহবুবুল আলম। এ বিষয় মুঠো ফোনে কলেজের অধ্যক্ষর নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান আমাদের কোনো দোষ নেই সব দোষ ইঞ্জিনিয়ার ও ঠিকাদারের। আমি মৌখিক ছুটিতে আছি দায়িত্বে আছেন ভাইস প্রিন্সিপাল। মুঠো ফোনে ঠিকাদার মোঃ মিলন ও ইঞ্জিনিয়ার এর কাছে জানতে চাইলে কোনো সদ উত্তর দিতে পারেনি তারা।

মোংলার বুডিরডাঙ্গা এলাকাবাসীর সংবাদ সম্মেলন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন

মোংলার বুডিরডাঙ্গা এলাকাবাসীর সংবাদ সম্মেলন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন
এলাকাবাসীর সংবাদ সম্মেলন  
মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধিঃমোংলার বুড়িরডাঙ্গার বাসিন্দা মো: দেলোয়ার হোসেনের অত্যাচার, নির্যাতন ও হয়রানী থেকে বঁাচতে সংবাদ সম্মেলন করেছে স্থানীয়রা। বুধবার সকালে উপজেলার বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের সরকার মার্কেটে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, ১৯৭১ সালে নারী নির্যাতন, ডাকাতিসহ নানা অপকর্মের সাথে জড়িত ছিলেন দেলোয়ার হোসেন। যুদ্ধ পরবর্তী তিনি নিজ জন্মস্থান বাগেরহাটের রাধাবল্লব এলাকা থেকে পালিয়ে অবস্থান নেন মোংলায়। এরপর ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে তিনি ভূয়া কাজগপত্র তৈরী করে তা দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা সেজে গেছেন। ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা সেজে তিনি গায়ের জোরে বুড়িরডাঙ্গা এলাকায় রামরাজত্ব কায়েম করেছেন। স্থানীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজনের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করে চলেছেন তিনি। এলাকাবাসীর অভিযোগ তারা দেলোয়ার হোসেনের ভূয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদ বাতিল করতে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন সরকারের উচ্চ পর্যায়ে। স্থানীয় প্রশাসনের তদন্তে সত্য প্রমাণিত হলেও নেয়া হয়নি দেলোয়ারের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা বা বাতিল করা হয়নি তার মুক্তিযোদ্ধার সনদ। বরং উল্টো তার (দেলোয়ারের) বিরুদ্ধে অভিযোগকারী স্থানীয় সংখ্যালঘু সুদীপ সরকার, প্রানেশ সরকার ও উত্তম সরকারকে নানাভাবে হয়রানী করছেন দেলোয়ার। সংবাদ সম্মেলনে তারা দাবী করেন, দেলোয়ার হোসেন তার নিজের নানা অপকর্ম ডাকতে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রেরণকারীদের বিরুদ্ধে কয়েকদিন আগে একটি সংবাদ সম্মেলন করেছেন। ওই সংবাদ সম্মেলনে তিনি মনগড়া নানা বক্তব্য তুলে ধরে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করেন। এছাড়া সমাজের দর্পন সংবাদকমর্ীদেরকেও মিথ্যা তথ্য দিয়ে স্থানীয় সুনামধন্য ব্যবসায়ী প্রানেশ সরকার ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উত্তম সরকার এবং মানবাধিকার কমর্ী সুদীপ সরকারের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী আখ্যা দিয়ে সংবাদ পরিবেশন করিয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সকল নারী-পুরুষ ওই মিথ্যা সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। বুড়িরডাঙ্গা এলাকাবাসীর পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নরেন্দ্রনাথ সরকার ও সুলিনা বিশ্বাস। এ সময় স্থানীয় শতাধিক নারী-পুরুষ উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলন শেষে তারা সরকার মার্কেট এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এবং দেলোয়ারের অপকর্ম বন্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। 

বড়লেখায় সাপ্তাহিক গণশুনানি অনুষ্ঠিত

বড়লেখায় সাপ্তাহিক গণশুনানি অনুষ্ঠিত

   

 


আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার, প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা মোতাবেক সেবাপ্রত্যাশী নাগরিকদের বিভিন্ন সমস্যা‌। অভিযোগ ও আপত্তি নিয়ে সাপ্তাহিক গণশুনানি করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার,বড়লেখা মোঃ শামীম আল ইমরান। উপজেলা পরিষদ কনফারেন্স রুমে আয়োজিত এ গণশুনানিতে বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের সম্মুখে ২১জন সেবাপ্রত্যাশী তাদের আবেদন, অভিযোগ এবং সমস্যা নিয়ে কথা বলেন। উপস্থিত বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের সহায়তায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার,বড়লেখা এগুলোর তাৎক্ষনিক সমাধান প্রদান করেন।

আত্রাইয়ে দূর্গা পুজায় স্বাস্থ্যবিধি পালনে কড়াকড়ি নির্দেশনা

 আত্রাইয়ে দূর্গা পুজায় স্বাস্থ্যবিধি পালনে কড়াকড়ি নির্দেশনা




মোঃ ফিরোজ হোসাইন,রাজশাহী ব্যুরোঃ নওগাঁর আত্রাইয়ে দূর্গা পুজায় স্বাস্থ্যবিধি পালনে কড়াকড়ি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।বুধবার সকালে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এক মত বিনিময় সভায় আসন্ন সারদীয় দূর্গাপুজায় সরকারী নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে উপদাপনে বিভিন্ন দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্যদেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ছানাউল ইসলাম।এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ মোঃএবাদুর রহমান প্রামানিক, এসিল্যান্ড আরিফ মুর্শেদ মিশু, ভাইস চেয়ারম্যান শেখ হাফিজুল ইসলাম ও মমতাজ বেগম, ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বাবু, নাজমুল হক নাদিম, উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সত্যেন চক্রবর্তী, সম্পাদক বরুন কুমার সরকার, যুগ্ম-সম্পাদক সাংবাদিক তপন কুমার সরকার, হিন্দু বৌদ্ধ খৃস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি স্বপন কুমার দত্ত, আনছার ভিডিপি অফিসার আমিনুল হক,এজিএম ফিরোজ জামান, এসআই হরেন্দ্রনাথ সরকার, যুব উন্নয়ন অফিসার ফজলুল হক, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুস ছালাম, প্রতিবন্ধী অফিসার পিএম কামরুজ্জামান প্রমুখ।পরে মন্দির কমিটির সভাপতির হাতে বরাদ্দের চালের ডিও তুলে দেওয়া হয়।

কুলাউড়ায় গণধর্ষণের শিকার তরুণী,ধর্ষক আটক

 কুলাউড়ায় গণধর্ষণের শিকার তরুণী,ধর্ষক আটক

আকরাম হোসাইন প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় টাকার জন্য বাবা মেয়েকে ধর্ষকের হাতে তুলে দেয়ার ঘটনা ঘটলো।নোয়াখালী থেকে বাবার (সৎ) বাড়িতে বেড়াতে এসে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী। তিন ধর্ষক থানায় আটক।

গ্রেপ্তারকৃত তিনজন হলো- উপজেলার গাজিপুর এলাকার আরজন আলী (২৪), একই এলাকার কাশেম আলী (২৫) ও পাপ্পু সূত্রধর (২৩)।গণধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর বাড়ি নোয়াখালীতে। ওই কিশোরী কুলাউড়ার জয়পাশা এলাকায় তাঁর বাবার (সৎ) বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন।

থানা সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাতে ওই কিশোরীর বাবা টাকার জন্য মেয়েকে ওই তিন যুবকের হাতে তুলে দেয়। পরে ওই মেয়েকে ৩ যুবক মনছড়া এলাকার এক বাড়িতে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। বুধবার সকালে বিষয়টি মনছড়ার স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনা বুঝতে পারলে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে ও তিন ধর্ষণকারীকে গ্রেপ্তার করে। ঘটনার প্রধান আসামি ওই কিশোরীর বাবা ইমরান হোসেন পলাতক রয়েছে।ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

দেশীয় প্রজাতির উদ্ভিদ রক্ষায় বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে সরকার-পরিবেশ মন্ত্রী মো: শাহাব উদ্দিন

দেশীয় প্রজাতির উদ্ভিদ রক্ষায় বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে সরকার-পরিবেশ মন্ত্রী মো: শাহাব উদ্দিন


আকরাম হোসাইন প্রতিনিধি :: পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার বন, বনভূমি ও বন্যপ্রাণী রক্ষায় বদ্ধপরিকর। এর অংশ হিসেবে সরকার বাংলাদেশে বিলুপ্তির সম্মুখীন উদ্ভিদ প্রজাতির রেড লিস্ট প্রস্ততকরণ এবং আগ্রাসী বিদেশী গাছের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে দেশজ উদ্ভিদ প্রজাতি তথা বনজসম্পদ রক্ষার কৌশলগত ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি উদ্ভাবনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এটি বাস্তবায়িত হলে আমাদের এসডিজি বা টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়তা করবে।

আজ ১৪ অক্টোবর বুধবার বন অধিদপ্তরে “বাংলাদেশের উদ্ভিদ প্রজাতির জাতীয় রেডলিস্ট প্রণয়ন এবং নির্বাচিত সংরক্ষিত বনাঞ্চলের বিদেশী আগ্রাসী উদ্ভিদ ব্যবস্থাপনার উদ্ভাবন’ বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী এসব কথা বলেন। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার এমপি, সচিব জনাব জিয়াউল হাসান এনডিসি, অতিরিক্ত সচিব আহমদ শামীম আল রাজী, বাংলাদেশ ন্যাশনাল হারবেরিয়ামের পরিচালক পরিমল সিংহ, সুফল প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মোঃ রকিবুল হাসান মুকুল, আইইউসিএন বাংলাদেশের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ রাকিবুল আমীন প্রমুখ কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন। সভাপতিত্ব করেন প্রধান বন সংরক্ষক মোঃ আমীর হোসেন চৌধুরী।

বন মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বন অধিদপ্তরের টেকসই বন ও জীবিকা (সুফল) প্রকল্পের আর্থিক সহায়তায় বাংলাদেশ ন্যাশনাল হারবেরিয়াম ও আইইউসিএন বাংলাদেশ কর্তৃক গৃহীত প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশে ১০০০ উদ্ভিদ প্রজাতির রেড লিস্ট প্রণয়ন সম্পূর্ণ হলে আমরা উদ্ভিদ ও বন সংরক্ষণে একটি বড় ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবো। তিনি বলেন, আমরা এরই মধ্যে প্রায় ৪০ টির অধিক জাতীয় উদ্যান ও অভয়ারণ্য ঘোষণা করেছি যা বন ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। বনায়ন সম্প্রসারণে বেসরকারী এবং ব্যক্তি উদ্যোগে রোপণকৃত বিদেশী উদ্ভিদ প্রজাতির একটি বড় অংশ দেশীয় উদ্ভিদের অস্তিত্বের জন্য বিপদজনক হয়ে দাড়িয়েছে।

মন্ত্রী জানান, এই প্রকল্পের একটি বড় কাজ হলো বিদেশী প্রজাতির উদ্ভিদ চিহ্নিতকরণ এবং আগ্রাসী উদ্ভিদ সঠিক ব্যবস্থাপনার জন্য ৫টি ম্যানেজমেন্ট প্ল্যান প্রণয়ন করা।বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে সুফল প্রকল্পের আওতাধীন কর্মসূচিটির সঠিক বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশের বন ও পরিবেশ রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে মর্মে মন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন।  এলক্ষ্যে তিনি সবাইকে সরকারের সাথে বন-বন্যপ্রাণি ও পরিবেশ রক্ষায় একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান। দেশের জনগণ যার যার অবস্থান থেকে সাধ্যমত কাজ করার মাধ্যমে পরিবেশগত উন্নয়নে আমাদের দেশ পৃথিবীতে রোল মডেল হিসেবে স্থান করে নিবে তিনি এই প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

কর্মশালার ২য় পর্বে 'বাংলাদেশের উদ্ভিদ প্রজাতির জাতীয় রেডলিস্ট প্রণয়ন' এবং ' বিদেশী আগ্রাসী উদ্ভিদ ব্যবস্থাপনা কৌশলপত্র প্রণয়ন ' শীর্ষক দুটি কর্ম অধিবেশনে বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন।

যশোরে কাঁচামরিচ সহ সবজির দামের অস্বাভাবিক বৃদ্ধি - বিপাকে ক্রেতারা

 যশোরে কাঁচামরিচ সহ সবজির দামের অস্বাভাবিক বৃদ্ধি  - বিপাকে ক্রেতারা

মোরশেদ আলম,যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধিঃ গত কয়েক মাস থেকে করোনা দূর্যোগের কারনে অনেকে কর্মহীন হয়ে পড়েছে, বেসরকারি অনেক চাকরিজীবী চাকরি  হারিয়েছে, এর বাইরে ছোট ও মধ্যম মানের ব্যবসায়ীদেরও ব্যবসায় অনেক টা ধ্বস নেমেছে। অসহায় অবস্থার মধ্যে দিয়ে পার হচ্চে অধিকাংশ মানুষের জীবন। কিন্তু এই চরম দূর্দিনেও কাচাবাজার এর মূল্য প্রতিদিন ই মানুষের ক্রয়  ক্ষমতার বাইরে যাচ্চে। 

যশোর কেশবপুরে কাঁচাবাজারে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়  দ্রব্যমূল্যের দাম নিয়ে জনসাধারণ এর ক্ষোভের অভাব নেই।

বাজার করতে আসা একজন বলেন  কাঁচা বাজারে কিছু কেনাকাটা করাটা কষ্টকর হয়ে পড়েছে সাধারণ কর্মহীন মানুষের জন্য।

বিভিন্ন বাজার পরিদর্শন করে দেখা যায়, সব ধরনের সবজির দামের পাশাপাশি লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে কাঁচা মরিচের দাম। তিন থেকে সাত দিনের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের দাম প্রায় ২৪০ টাকায় পৌঁছেছে। এই সময়ে মরিচের দাম প্রতি কেজিতে বৃদ্ধি পেয়েছে ১০০ টাকা এবং সব ধরনের সবজির দাম ১৫ থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে।


 বাজারে চাহিদার তুলনায় পর্যাপ্ত সবজির সরবরাহ থাকলেও বৃদ্ধি পেয়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় এসব সবজির দাম। ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের কারণেই এটি হচ্ছে বলে অভিযোগ ক্রেতাদের।


 বাজারে প্রতিকেজি কাঁচা মরিচ ২৪০ টাকা, বেগুন ৭৫ থেকে ৮০ টাকা, খিরই ৪০ থেকে ৫০ টাকা, গাজর ১০০ টাকা, টমেটো ১০০ থেকে ১২০ টাকা, ঝিঙে ৪৫ টাকা, পটল ৫০ টাকা, পেঁপে ৩০ থেকে ৪০ টাকা, আলু ৪৪ টাকা, ঢেঁড়স ৪০ টাকা, উচ্ছে ৮০ থেকে ৯০ টাকা, করল্লা ৮০ টাকা, বরবটি ৫০ টাকা, কাঁকরল ৭০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৩০ থেকে ৩৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।যশোর এর প্রায় সব বাজারে একই চিএ দেখা যাচ্চে। 

তবে ককয়েকদিন আগেও এসব পণ্যের দাম ছিল মোটামুটি স্বাভাবিক। কয়েক দিন আগে কাঁচা মরিচ ১৫০ টাকা, বেগুন ৫০ টাকা, গাজর ৮০ টাকা, খিরই ৩০ থেকে ৩২ টাকা, টমেটো ১০০ টাকা, ঝিঙে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা, পটল ৩০ থেকে ৩২ টাকা, পেঁপে ২০ থেকে ২২ টাকা, আলু ৩৫ টাকা, ঢেঁড়স ৪০ টাকা, উচ্ছে ৬০ টাকা, করলা ৫০ থেকে ৫৫ টাকা, বরবটি ৪০ টাকা, কাকরল ৫০ থেকে ৫২ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ২৫ থেকে ২৮ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছিল।


কেশবপুর বাজারে আসা ক্রেতা সাইফুল ইসলাম বলেন, করোনার সময়ে অধিকাংশ মানুষ কর্মহীন আসহায় হয়ে পড়েছে। ফলে নিম্ন ও মধ্য আয়ের মানুষ পড়েছে বিপাকে। দাম যাতে শিগগির নিয়ন্ত্রণে আসে এজন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

কেশবপুর বাস স্টান্ড সংলগ্ন তরকারি বাজারে আসা ক্রেতা মজিবার চাচা বলেন, ‘সবজির বাজার বেসামাল অবস্থা। ককয়েকদিনের  মধ্যে কাঁচা মরিচের দাম কেজিপ্রতি কমপক্ষে ৮০ থেকে ১০০ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সঙ্গে বৃদ্ধি পেয়েছে সব ধরনের সবজির দামও। বিপাকে পড়েছে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের মানুষ।

কেশবপুর বাজারে এক ব্যাবসায়ী বলেন, দেশে এবার বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বেশি,, এতে সবজিসহ তরিতরকারির ক্ষেত ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এজন্য ব্যবসায়ীরা বাইরের জেলা থেকে এসব সবজি ও ঝাল ক্রয় করে আনছে। পরিবহন ভাড়া বেশি হওয়ার কারণে সবজি ও ঝালের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।সবজির সরবরাহ কমে যাওয়ায় কাঁচা ঝাল সহ সবধরণের সবজির দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ।

আশাশুনিতে ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান -এ বি এম মোস্তাকিম

 আশাশুনিতে ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান -এ বি এম মোস্তাকিম




আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃআশাশুনি উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে খেলাধুলার সামগ্রী বিতরণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মোস্তাকিম। বুধবার দুপুরে উপজেলা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে এ খেলার সামগ্রী বিতরণ করা হয়।শোভনালী ইউনিয়নের মজগুরখালী স্পোর্টিং ক্লাবের উপদেষ্টা আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ নজরুল ইসলাম গাইনের হাতে তিনি এ খেলার সামগ্রী তুলে দেন। বিতরণ কালে এ বি এম মোস্তাকিম বলেন, ছাত্র-যুবকরা আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। একমাত্র খেলাধুলা পারে সমস্ত অন্যায়, অপরাধ ও অসামাজিক কার্যকলাপ থেকে বিরত রাখতে। এজন্য সকলকে লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলায় মনোনিবেশ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা খেলাধুলার ব্যাপারে অত্যন্ত আন্তরিক এজন্য তিনি প্রতিটি উপজেলায় খেলার সামগ্রীর ব্যবস্থা করেছেন যাহাতে গ্রামের ছেলে মেয়েরা খেলাধুলার সুযোগ থেকে যেন বঞ্চিত না হয়।দেশের রাজনৈতিক সামাজিক ও অর্থনৈতিক ভারসাম্য রক্ষার জন্য তিনি  তরুণ, যুবকদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী,উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, দপ্তর সম্পাদক জগদিস চন্দ্র সানা, সাবেক ছাত্রনেতা হোসেনুজ্জামান হোসেন, শোভনালী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ফরহাদ আহমেদ নয়ন, মজগুরখালী স্পোর্টিং ক্লাবের কর্মকর্তা ও সদস্যবৃন্দ।

কয়রায় নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে সড়ক নির্মাণ, ক্ষোভ এলাকাবাসীর

 কয়রায় নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে সড়ক নির্মাণ, ক্ষোভ এলাকাবাসীর

কয়রা প্রতিনিধিঃখুলনার কয়রা উপজেলায় একটি সড়ক উন্নয়ন কাজে নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সড়কটি নির্মাণ চলাকালিন স্থানীয় মানুষের অভিযোগের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সরেজমিন তদন্ত পূর্বক নিম্নমানের মালামাল অপসারনের নির্দেশ দেন। কিন্তু ঠিকাদার সে নির্দেশ উপেক্ষা করে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করছেন। এতে স্থানীয় মানুষের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সড়কটির নির্মাণকারি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স অগ্রনী কনস্ট্রাকসন্স এর মালিক স্থানীয় আমাদি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা আমীর আলী গাইন। এলাকাবাসির অভিযোগ, ইউপি চেয়ারম্যান তাঁর নিজস্ব ভাটার নিম্নমানের ইটের খোয়া দিয়ে সড়ক নির্মাণের চেষ্টা করছেন। এতে ওই সড়কের স্থায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। কয়রা উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, আমাদি ইউনিয়নের চন্ডিপুর বটতলা থেকে খিরোল লঞ্চঘাট পর্যন্ত এক কিলোমিটার সড়কের উন্নয়নের কাজ চলমান রয়েছে। সড়কটিতে এর আগে ইটের সলিং ছিল বর্তমানে সেটি পিচ ঢালাই করা হচ্ছে। সড়কটির উন্নয়নে ব্যয় ধরা হয়েছে ৮৬ লাখ ৫১ হাজার ৫৯৪ টাকা। এর মধ্যে পুরাতন ইটের দাম ধরা হয়েছে প্রায় ২৫ লাখ টাকা। স্থানীয়দের অভিযোগ, রাস্তার পুরাতন ইট ব্যবহারের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ঠিকাদার নিজের ভাটার একেবারে নিম্নমানের ইটের খোয়া মিশিয়ে দিচ্ছেন। ফলে রোলারের চাপে তা গুড়ো হয়ে বালি ও মাটির সাথে মিশে গেছে। তার উপর দিয়েই পিচ দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে এলাকাবাসির অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল দপ্তর থেকে তদন্তে সত্যতা মেলে। এ প্রেক্ষিতে গত ২০ ও ২৪ সেপ্টেম্বর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কাজের সাইট থেকে নিম্নমানের সামগ্রী অপসারনের জন্য পৃথক নোটিশ করা হয়। ঠিকাদার নোটিশের তোয়াক্কা না করে কাজ চলমান রেখেছেন।চন্ডিপুর গ্রামের বাসিন্দা সুপদ কুমার ঢালী বলেন, কতৃপক্ষের 

নোটিশ পেয়েও ঠিকাদার নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। আমরা বাঁধা দিতে গেলে উল্টো চাঁদাবাজির মামলা 

ফাঁসানের ভয় দেখানো হচ্ছে। তাঁর অভিযোগ, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামীগ নেতা হওয়ায় তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন। তাঁর ভয়ে প্রকাশ্যে কেউ কথা বলতে সাহস পাচ্ছেন না। জানতে চাইলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক ও ইউপি চেয়ারম্যান আমীর আলী গাইন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, দরপত্রের চুক্তিতে রাস্তার 

সোলিংয়ের পুরাতন ইট ব্যবহারের অনুমতি রয়েছে। সেই ইট ও কিছু নতুন ইট ব্যবহার করায় কাজের মান খারাপ হতে পারে। কর্তৃপক্ষের নির্দেশে কাজ বন্ধ করে খারাপ  ইট অপসারন করা হয়েছে। কয়রা উপজেলা প্রকৌশলী আজিজুর রহমান বলেন, এলাকাবাসির অভিযোগ পেয়ে সাইট থেকে নিম্নমানের মালামাল অপসারনের জন্য ঠিকাদারকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। একই সাথে সড়কের কাজ ভাল করার জন্যও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মনিরামপুরে শিক্ষার্থীদের মাঝে সাইকেল বিতরণ

 মনিরামপুরে শিক্ষার্থীদের মাঝে সাইকেল বিতরণ




মোঃ আবু নাইম কাজী, স্টাফ রিপোর্টারঃযশোর মনিরামপুরে শ্যামকুড় ইউনিয়ন পরিষদে( এল জি এস পি - ৩) প্রকল্পের সাইকেল বিতরণ করা হয়েছে। 

আজ বুধবার ১৪.১০.২০ তারিখে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে  শিক্ষার্থীদের মাঝে সাইকেল বিতরণ করেন মনিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ জাকির হোসেন। 


এ সময় উপস্থিত ছিলেন শ্যামকুড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনির,  সুন্দলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছায়েদ আলী ,বাংগালীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুজিবুর রহমান, ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ ,আব্দুল হালিম ,রফিকুল ইসলাম, গোলাম মোস্তফা ,সিরাজুল ইসলাম।


এছাড়াও আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কাশেম, মাস্টার সন্তোষ কুমার পাল, যুবলীগ নেতা জামাল ,আক্কাস ,রাজু, রবিউল ,আব্দুর রাজ্জাক ,ছাত্রলীগ নেতা জাকির হোসেন, হোসাইন রহমান,আ দেবাশীষ দেবনাথ প্রমুখ ।

যশোরে বাসের মধ্যে ধর্ষণের বর্ণনায় আদালতে যা বললেন ওই নারী

 যশোরে বাসের মধ্যে ধর্ষণের বর্ণনায় আদালতে যা বললেন ওই নারী


সুমন হোসেন,  যশোর জেলা প্রতিনিধিঃযশোরে বাসের মধ্যে ধর্ষণের অভিযোগে রুজু হওয়া মামলার বাদী ২৫ বছর বয়সী নারী মঙ্গলবার আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক শম্পা বসু তার জবানবন্দি গ্রহণ করেন। আদালত সূত্র জানায়, জবানবন্দিতে ওই নারী বলেছেন, বাসের হেলপার মনিরুল ইসলাম মনি তার পূর্ব পরিচিত। ঘটনার দিন বিকেলে রাজশাহী থেকে তিনি বাসে ওঠেন। রাতে যশোরের মণিহার এলাকায় এসে পৌঁছায় গাড়িটি। এ সময় তিনি ও মনি সেখানকার একটি হোটেলে খাওয়া-দাওয়া করেন। পরে মনিরুল ইসলাম মনি রাতে আশ্রয় দেওয়ার কথা বলে তাকে বাসের ভেতর নিয়ে যান। দরজা আটকে দিয়ে বাসের ভেতর তাকে ধর্ষণ করেন মনি। এরপর অপরিচিত দুজন এসে ধাক্কাধাক্কি করলে মনিরুল ইসলাম মনি বাসের দরজা খুলে দেন। পরে ওই দুই ব্যক্তি বাসের ভেতর ঢুকে তাকে মারধর ও শ্লীলতাহানি ঘটান।

আদালতে জবানবন্দি গ্রহণ শেষে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক টি এম মুসা ওই নারীকে তার ভাইয়ের জিম্মায় দেওয়ার আদেশ দেন । মামলার তদন্ত কর্মকর্তা যশোর কোতয়ালী থানার ইনসপেক্টর (অপারেশনস) শেখ আবু হেনা মিলন জানান, ওই নারীকে মঙ্গলবার শেল্টারহোম থেকে আদালতে আনা হয়। পরে তিনি আদালতে জবানবন্দি প্রদান করেন। গত ৮ অক্টোবর রাতে বকচর হুশতলায় এম কে পরিবহনের একটি বাসের ভেতর বাঘারপাড়া উপজেলার একটি গ্রামের ওই নারীকে পূর্ব পরিচিত মনিরুল ইসলাম মনি আশ্রয় দেওয়ার কথা বলে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ উঠে। পরে ওই রাতে আরো ছয় শ্রমিক সেখানে গিয়ে তাকে মারধর এবং এর মধ্যে তিনজন তার শ্লীলতাহানি ঘটান এমন অভিযোগ এনে মামলা করেন ওই নারী। অভিযুক্তদের মধ্যে মনিরুল ইসলাম মনি গত ১০ সেপ্টেম্বর আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

পটিয়ায় মাসব্যাপী ক্রিকেট প্রশিক্ষণ ক্যাম্প সম্পন্ন

 পটিয়ায় মাসব্যাপী ক্রিকেট প্রশিক্ষণ ক্যাম্প সম্পন্ন

 সেলিম  চৌধুরী স্টাফ রিপোর্টারঃ-চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া অফিসের ব্যবস্থাপনায় ক্রীড়া পরিদপ্তরের বার্ষিক ক্রীড়া পঞ্জি ২০১৯-২০ এর আওতায় পটিয়া উপজেলায় মাসব্যাপী (অনুর্ধ্ব-১৬) বালকদের ক্রিকেট প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের সমাপনী ও সনদ বিতরণ আজ বিকাল ৩ টায় চক্রশালা কৃষি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রশিক্ষনার্থীদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন পটিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতিজনাব ফয়সাল আহমেদ। সিজেকেএস এর সাবেক নির্বাহী সদস্য ইঞ্জিনিয়ার জসীম উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও কচুয়াই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক উৎপল সরকার রাজুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া অফিসার ও সিজেকেএস নির্বাহী সদস্য মনোরঞ্জন দে, কচুয়াই ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও চক্রশালা কৃষি উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আবদুল খালেক,চক্রশালা কৃষি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সমর কান্তি বিশ্বাস, চক্রশালা যুব নিশান ক্লাবের সভাপতি মফিজুর রহমান, পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও খরনা ইউপি সদস্য মোঃ হাশেম, খরনা ইউনিয়ন আওয়ামীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ, প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের সমন্বয়কারী রাশেদুল ইসলাম, কৃতি ক্রিকেটার জয় দে, আজাদ ফারুকী ও সৌরভ ভট্টাচার্য্য প্রমূখ। উক্ত কর্মসূচীতে পটিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকার প্রায় ৫০ জন তরুণ ক্রিকেটার অংশগ্রহণ করে।

মাদকের বিরুদ্ধে অব্যাহত মোবাইল কোর্ট

 মাদকের বিরুদ্ধে অব্যাহত মোবাইল কোর্ট




আকরাম হোসাইন প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের আল্লাদাদ চা বাগান এলাকায় সন্ধ্যা ৬.৩০-৮.৩০ ঘটিকা পর্যন্ত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে দেশিয় মদ ও গাজা সহ দুজন কে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। আসামি দুজন দোষ স্বীকার করায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার,বড়লেখা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ শামীম আল ইমরান মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮ অনুসারে প্রত্যেককে ০৬(ছয়)মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। শাহবাজপুর তদন্তকেন্দ্রের ইনচার্জ মোঃ মোশাররফ হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ মোবাইল কোর্ট কে সহায়তা প্রদান করেন।

মাগুরার শ্রীপুরে মাদকসহ যুবক আটক

 মাগুরার শ্রীপুরে মাদকসহ যুবক আটক




মো:রাসেল হোসেন শ্রীপুর (মাগুরা) প্রতিনিধিঃমাগুরার শ্রীপুরে ইয়াবাসহ এক যুবককে আটক করেছে নাকোল পুলিশ ক্যাম্প।মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) রাতে শ্রীপুর উপজেলার ওয়াপদা বাজারের নিকটে শাফলগাছা হতে কামরুল খান(২২),পিং-এছেম খান,সাং,সাফলগাছা ১৯টি ইয়াবা বড়ি সহ নাকোল পুলিশ ক্যাম্পের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা এস আই প্রসনজিত এর নেতৃত্বে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ জানায়, কামরুল এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। তার বিরুদ্ধে শ্রীপুর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।