ম্রীপুরে দুয়া ও মিলাদ মাহফিল

ম্রীপুরে দুয়া ও মিলাদ মাহফিল



মোঃকুতুবুল আলম, মহম্মদপুর, (মাগুরা)প্রতিনিধিঃ আজ  ২৮ অক্টোবর ২০২০ ইং রোজ বুধবার  সন্ধায় শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের  উদ্দ্যোগে  মাগুরা জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ন আহ্বায়ক মোঃ সোহরাব হোসেন সবুজের করোনা মুক্তির জন্য  স্থানীয়  শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের এর পার্টি অফিসে দুআ ও মিলাদ মাহফিলের মাধ্যমে সেবকলীগ নেতার আরোগ্যমুক্তি কামনা করেন  উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের  নেতৃবৃন্দ। 

এছাড়াও সভায় মাগুরাবাসীর স্বপ্নের রেল লাইনের জন্য ৩১ অক্টোবর ২০২০ তারিখে মাননীয় রেলমন্ত্রীর মাগুরায় আগমন উপলক্ষে  মতবিনিময় করেন স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতাকর্মীরা।

সভায় শ্রীপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মোঃ কবির হোসেনের সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠানের  সঞ্চাচালনা করেন শ্রীপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ আলী নুর মোল্যা।এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ এরশাদ মোল্যা, সহ সভাপতি মোঃ ফারুক হোসেন, সহ-সভাপতি শফিকুজ্জামান রিপন,সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ রুবেল মোল্যা,সাংগঠনিক সম্পাদক ১ মোঃ শাওন, দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ শফিউল্লাহ কর্নেল,স্বেচ্ছাসেবকলীগের অন্যতম পরিশ্রমী নেতামোহাম্মদ হাসান,আব্দুর রশিদ মোল্যা,মোঃ আকিদ মোল্যা,মোঃ রাজিব,মোঃ মন্জু, মোঃ সাদ্দামসহ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।

করোনায় আক্রান্তের বিষয়ে মুঠোফোনে মোঃ সোহরাব হোসেন সবুজ জানান,  গত ২৩ অক্টোবর ২০২০ তারিখে সিভিল সার্জনের রিপোর্টে  তার পরিবারের সকল সদস্যের করোনা পজেটিভ আসে। তার মধ্যে তার বাবা -মা সহ তার ছোট্ট সন্তান ও রয়েছে। বর্তমানে তারা করোনা মোকাবেলায় ৫ম দিনে রয়েছেন হোম আইসুলেশন মেনে নিজ বসতিতে। বর্তমান পরিবারের সকলের অবস্থা একটু স্বাভাবিক। তিনি আশা করেন দ্রুতই তারা করোনা মুক্তি লাভ করবেন এবং সকলের কাছে দুআ চান।

আলোচনা সভায় শ্রীপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের  সভাপতি মোঃ কবির হোসেন মোল্যা সমবেদনা ও পাশে থাকার কথা ব্যক্ত করেন এবং সকলের কাছে তার আরোগ্যমুক্তির দুআ চেয়েছেন।উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ আলী নুর মোল্যা জানান, সোহরাব হোসেন সবুজ ভাই দীর্ঘদিন ধরেই ছাত্ররাজনীতির সাথে একান্তভাবে জড়িত।  বর্তমান তিনি মাগুরা জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক।  করোনার কারনে দেশের ক্রান্তিলগ্নে তিনি কাজ করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে। কিছু দিন যাবত তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন জানতে পেরেছি সেই উপলক্ষে শ্রীপুর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের  পক্ষ থেকে আর সুস্থতা কামনা করি। দুআ অনুষ্ঠানে সেবকলীগ নেতা সোহরাব হোসেন সবুজ  সহ তার পরিবারের সকলের জন্য মহান আল্লাহর কাছে  দীর্ঘায়ু ও সার্বিক মঙ্গল কামনা করে দোআ পরিচালনা করেন হাফেজ মোঃ আব্দুর রশিদ মোল্যা।

নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর সাথে মুক্তিযোদ্ধাদের মতবিনিময়

নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর সাথে মুক্তিযোদ্ধাদের মতবিনিময়

 


আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা জেলার দেবহাটার নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার, তাছলিমা আক্তারের সাথে, মুক্তিযোদ্ধাদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।বুধবার (২৮ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলা পরিষদের সভা কক্ষে, অনুষ্ঠিত সভায়, বীরমুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী  অফিসার তাছলিমা আক্তার। মতবিনিয়য় সভায় বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোশারফ হোসেন মশু, জেলা যুদ্ধহত মুক্তিযোদ্ধা সমিতির সভাপতি আব্দুল মাবুদ গাজী, দেবহাটা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সুভাষ ঘোষ, ডেপুটি কমান্ডার ইয়াসিন আলী, আব্দুল হামিদ, দেবহাটা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওহাব, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার বদরুজ্জামান, কৃষি অফিসার শরীফ মোহাম্মাদ তিতুমির। মতবিনিময় সভা পরিচালনা করেন, বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ। এসময় উপজেলার বিভিন্ন পর্যয়ের মুক্তিযোদ্ধারা উপস্থিত থেকে উপজেলার বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরেন।

মহেশপুরে বীরশ্রেষ্ট শহীদ সিপাহী হামিদুর রহমানের ৪৯ তম শাহাদত বার্ষিকী পালন

 মহেশপুরে  বীরশ্রেষ্ট শহীদ সিপাহী হামিদুর রহমানের ৪৯ তম শাহাদত বার্ষিকী পালন



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃবীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী হামিদুর রহমানের ৪৯ তম শাহাদত বার্ষিকী পালন উপলক্ষে আজ ২৮ অক্টোবর(বুধবার)বিকালে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলা  আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়,এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাজ্জাদুল ইসলাম সাজ্জাদ,সাধারণ সম্পাদক মীর সুলতানুজ্জামান লিটন,এস বি কে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বগা,জেলা কৃষকলীগের যুগ্ন সম্পাদক শরিফুল ইসলাম,উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও পৌর কাউন্সিলর কাজী আতিয়ার রহমান,উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক ইয়াকুব আলী,উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক শাহেদ মেহবুব রনজু,উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আমিনুর রহমান প্রমূখ।

কোটচাঁদপুর তালসার বাজারে ইসলামী এজেন্ট ব্যাংকিং শুভ উদ্বোধন

কোটচাঁদপুর তালসার বাজারে ইসলামী এজেন্ট ব্যাংকিং শুভ উদ্বোধন


 খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, খুলনা ব্যুরো প্রধানঃএজেন্ট ব্যাংকিং বাংলাদেশে ক্রমশ বিকশিত হচ্ছে। আর এরই ধারাবাহিকতায় ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুর উপজেলার তালসার গ্রামে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিঃ এর এজেন্ট ব্যাংক উদ্বোধন করা হয়েছে।

বুধবার বিকাল ৪.৩০ দিকে উপজেলার তালসার বাজারে প্রধান অতিথি হিসেবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কোটচাঁদপুর সার্কেল মোহাইমিনুল ইসলাম এই এজেন্ট ব্যাংকের শুভ উদ্বোধন করেন।

এসময় ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিঃ এর কোটচাঁদপুর শাখার অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস-প্রেসিডেন্ট মোসতাক আহমেদ এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর  আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক সহিদুজ্জামান সেলিম, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক জাহিদ হোসেন, ইউপি সদস্য গোলাম কিবরিয়া বিপ্লব, সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ শাহিন, ইসলামি ব্যাংকের এজেন্ট (মের্সাস রাফি আয়ান এগ্রো ফিড এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী) মাবুদ হাসান বাপ্পি এবং কোটচাঁদপুর রিপোটার্স ইউনিটি"র সাংবাদিকবৃন্দ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে স্থানীয় পেশাজীবী, ব্যবসায়ী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।উদ্বোধনকালে স্বাগত বক্তব্যে ইসলামি ব্যাংকের এজেন্ট রাবিতা এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মাবুদ হাসান বাপ্পি বলেন, ইসলামী ব্যাংক একটি কল্যাণমুখী ব্যাংক। জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সব মানুষের কাছে ইসলামী ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দেয়াই এ ব্যাংকের কাজ। তাই জনগণের সেবার লক্ষ্যে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ এর এই এজেন্ট ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন করা হলো কোটচাঁদপুর  উপজেলায়।তিনি বলেন, মানুষকে সুদের অভিশাপ থেকে মুক্ত করার জন্য ইসলামী ব্যাংক কাজ করছে। তিনি ইসলামী ব্যাংকের সেবা গ্রহণের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।পাশাপাশি তিনি সর্বদাই ব্যাংকের এবং বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম-কানুন মেনে কার্যক্রম চালানোর চেষ্টা করার প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ইসলামী ব্যাংক কোটচাঁদপুর শাখার প্রিন্সিপাল অফিসার মামুন মিল্লাত।

সিরাজগঞ্জে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপির স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

 সিরাজগঞ্জে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপির স্মরণসভা অনুষ্ঠিত



মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রেসিডিয়াম সদস্য, ১৪ দলের মুখপাত্র সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপির স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।বুধবার বিকেলে শহরের শহীদ এম মনসুর আলী অডিটোরিয়ামে এই স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাবেকমন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, নির্বাহী সদস্য মেরিনা জাহান কবিতা, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না এমপি, আব্দুল মমিন মন্ডল এমপি, সহ-সভাপতি আবু ইউসুফ সূর্য্য, কে এম হোসেন আলী হাসান, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মনোয়ার হোসেন বিপুল, কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের যুগ্ম সম্পাদক জেদ্দা পারভীন রিমি, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সামাদ তালুকদার, আ’লীগ নেতা শামছুজ্জামান আলো প্রমখ বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা বলেন, পিতা শহীদ এম মনসুর আলীর মতই আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার প্রশ্নে আপোষহীন ছিলেন মোহাম্মদ নাসিম। তার বাবা বঙ্গবন্ধুর সাথে বিশ্বাস ঘাতকতা না করে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করে নিয়েছেন। মোহাম্মদ নাসিমও বাবার মতো আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার প্রশ্নে কোনদিন আপোষ করেননি। তিনি ছিলেন কর্মযোগী ও কর্মীবান্ধব একজন নির্ভীক রাজনীতিবিদ। গণতান্ত্রিক আন্দোলনে মাঠে থেকে পুলিশের লাঠিপেটা খেয়েও আন্দোলনে অটল ছিলেন তিনি। এ কারণেই জনগণের নেতাতে পরিণত হয়েছিলেন তিনি। তার মৃত্যুতে দেশ ত্যাগী নিঃস্বার্থ জননেতাকে হারিয়েছে।

এ সভায় ডা. আব্দুল আজিজ এমপি, সাবেক এমপি গাজী ম ম আমজাদ হোসেন মিলন, সাবেক এমপি শফিকুল ইসলাম শফি, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বিমল কুমার দাস, মোস্তফা কামাল খান, এ্যাডঃ আব্দুর রহমান, পৌর আ’লীগের সভাপতি হেলাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক দানিউল হক মোল্লা এবং আওয়ামী লীগ তার অঙ্গ সহযোগী সংঘঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিক নিয়োগ দেয়া চলছে

সাংবাদিক নিয়োগ দেয়া  চলছে

       


    

 জনপ্রিয় দৈনিক  কপোতাক্ষ  নিউজ পোর্টালের জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা, উপজেলা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস সহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রতিনিধি(শৃণ্য থাকা সাপেক্ষে) নিয়োগ দেয়া হবে 

যারা এ মহান পেশায় আসতে ইচ্ছুক তাদেরকে যোগাযোগ করতে বলা হল

যোগাযোগ : ০১৭২৭-৫৬৭৯৭৬ ( সম্পাদক )

-মেইল: mohsinlectu@gmail.com 

পটিয়ার জঙ্গলখাইনে মাহফিলে বক্তারা- কুরআন হাদিসের আলোকে ঈদে মিলাদুন্নবী

 পটিয়ার জঙ্গলখাইনে মাহফিলে বক্তারা- কুরআন হাদিসের আলোকে  ঈদে মিলাদুন্নবী




সেলিম চৌধুরী, পটিয়াঃপটিয়ার জঙ্গলখাইন চৌধুরী বাড়ি জামে মসজিদে ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ)  পাঁচ দিন ব্যাপি মাহফিলের শেষ দিবসে ২৭ অক্টোবর মঙ্গলবার   রাতে সম্পন্ন হয়েছে। এতে বক্তারা বলেন, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মুসলিম বিশ্বের ঈমানি প্রেরনার জয় ধ্বনী নিয়ে প্রতি বছর আমাদের মাঝে আসে রবিউল আওয়াল মাসে। পবিত্র ‘ঈদে মিলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পালন করা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের অন্যতম উৎসব। যুগে যুগে বাতিলদের শনাক্ত করার কিছু নিদর্শন ছিল। তেমনিভাবে তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমান সমাজে ও বাতিলদের চিনার নিদর্শন হল পবিত্র ‘ঈদে মিলাদুন্নবী’ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর বিরোধিতা করা। বাতিলদের বেড়াজাল থেকে মুসলিম মিল্লাতকে সচেতন করার উদ্দেশ্যে আমাদের  ক্ষুদ্র প্রয়াস।


প ২৭ অক্টোবর মঙ্গলবার শেষ দিবসে সভাপতিত্ব করেন শাখাওয়াত হোসেন চৌধুরী। উদ্বোধক ছিলেন জঙ্গলখাইন ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান  মাহবুর রহমান চৌধুরী। প্রধান ওয়াজিন ছিলেন  মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব মৌলানা আবদুল মোস্তাফা রাহিম আলকাদেরী, প্রধান বক্তা ছিলেন পটিয়া পৌর মাইজভান্ডারি গাউছিয়া হক কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট ব্যাবসায়ি   মোঃ  দিদারুল আলম, বিশেষ অতিথি ছিলেন পটিয়া প্রেসক্লাব যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দৈনিক জনতা ও দৈনিক ইনফো বাংলার   সাংবাদিক   সেলিম চৌধুরী, বিশেষ ওয়ায়েজিন করেন  মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব  হযরত মাওলানা শায়খ সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া আজহারী, মৌলানা  ছৈয়দ মোকারম বারী, মিলাদ মাহফিলের শেষ পর্বে সভাপতিত্বর করেন  আবদুল করিম,সঞ্চলনায় ছিলেন মাষ্টারমোজাম্মেল হক চৌধুরী ও মোঃ সাহেদ প্রমুখ। উক্ত মিলাদ মাহফিলের  মিলাদ মাহফিলে  আখেরি মোনাজাত শেষে তবররুক বিতরণ করা হয়।

আশাশুনির কুল্যায় ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের সাথে মতবিনিময় করলেন ইউপি চেয়ারম্যান

 আশাশুনির কুল্যায় ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের সাথে   মতবিনিময় করলেন ইউপি চেয়ারম্যান

আহসান উল্লাহ  বাবলু, আশাশুনি, সাতক্ষীরা   প্রতিনিধি: পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সঃ) উদ্যাপন উপলক্ষে আশাশুনি উপজেলার কুল্যায় ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের সাথে মতবিনিময় করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছেত আল হারুন চৌধুরী। বুধবার সকাল ১০টায় কুল্যা ইউনিয়ন পরিষদ হলরুমে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইউনিয়নের বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের সাথে মতবিনিময়কালে এসময় ইউপি চেয়ারম্যান ইউনিয়নের বিভিন্ন মসজিদের সার্বিক বিষয়ে খোঁজখবর নেন এবং ঈদে মিলাদুন্নবী (সঃ) উদযাপন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। এসময় ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের পক্ষে মাওলানা সোলাইমান আজিজী, মাওলানা ইয়াহিয়া ইকবাল, মাওলানা আব্দুল হান্নান, মাওলানা মাহবুবুল আলম, মাওলানা ইয়াছির আরাফাত, হাফেজ হাবিবুর রহমান, শহিদুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আব্দুল মোমিনের সঞ্চালনায় মতবিনিময়কালে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আমিনুল ইসলাম, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুস সামাদসহ ইমাম ও মুয়াজ্জিনবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও গ্রাম পুলিশবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সবশেষে মহামারী করোনা থেকে মুক্তি ও দেশ ও জাতির শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে দোয়া ও মোনজাত অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া ও মোনজাত পরিচালনা করেন মাওলানা আবু ছায়েম।

জবিতে সম্প্রসারিত মেডিকেল সেন্টারে প্যাথলজি ল্যাব স্থাপন কাজের উদ্বোধন

জবিতে সম্প্রসারিত মেডিকেল সেন্টারে প্যাথলজি ল্যাব স্থাপন কাজের উদ্বোধন



জবি প্রতিনিধিঃজগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) সম্প্রসারিত মেডিকেল সেন্টারে প্যাথলজি ল্যাব স্থাপন কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে।বুধবার (২৮ অক্টোবর ২০২০) ভাষা শহীদ রফিক ভবন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নীচতলায় সম্প্রসারিত মেডিকেল সেন্টারে প্যাথলজি ল্যাব স্থাপন কাজের উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান।

এসময় ট্রেজারার অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ, রেজিস্ট্রার, পরিচালক (অর্থ ও হিসাব), পরিচালক (পরিকল্পনা, উন্নয়ন ও ওয়ার্কস) সহ অন্যান্য শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।উল্লেখ্য সম্প্রসারিত মেডিকেল সেন্টারে প্যাথলজি ল্যাবসহ ১২ (বার) টি শয্যা ব্যবস্থা থাকবে।

জবিতে আন্তঃবিভাগ বির্তক প্রতিযোগিতা শুরু ৩০ অক্টোবর

 জবিতে আন্তঃবিভাগ বির্তক প্রতিযোগিতা শুরু ৩০ অক্টোবর

নিউজ ডেস্কঃ যুক্তির সমরে মুক্তির মিছিল" এই স্লোগানকে সামনে রেখে জগন্নাথ ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি (জেএনইউডিএস) বিশ্ববিদ্যালয়ের বিতার্কিকদের মুক্তচিন্তা প্রসার ও সুস্থ ধারার বিতর্ক চর্চায় সম্পৃক্ত রাখার লক্ষ্যে আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে দুইদিন ব্যাপী আন্তঃবিভাগ বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে যাচ্ছে।করোনাকালীন পরিস্থিতি বিবেচনায় "জেএনইউডিএস ১৫তম আন্তঃবিভাগ বিতর্ক প্রতিযোগিতা ২০২০" এবার অনলাইনের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে। এবারের আন্তঃবিভাগ বিতর্ক  প্রতিযোগিতায় ৩৪টি বিভাগ অংশগ্রহণ করবে। বির্তক প্রতিযোগিতাটি ৩০ অক্টোবর শুক্রবার থেকে ৩১ অক্টোবর শনিবার পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।বিতর্ক প্রতিযোগিতার নিয়মাবলিগুলো হচ্ছে প্রতি বিভাগ থেকে সর্বোচ্চ দুইটি টিম অংশগ্রহণ করতে পারবে। বিতার্কিকদেরকে বিভাগের নাম, দলের নাম (একাধিক টিমের ক্ষেত্রে), শিক্ষাবর্ষ, মোবাইল নম্বর ইত্যাদি জেএনইউডিএস অফিশিয়াল মেইল jnuds1992@gmail.com পাঠাতে হবে। বিতর্ক প্রতিযোগিতা জেএনইউডিএসের অফিশিয়াল ডিস্কোর্ড অ্যাপে অনুষ্ঠিত হবে। এ বিষয়ে জবি ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি জোনায়েদ হাসান ইমন বলেন, ' শিক্ষার্থীদের মেধা মননশীলতা চর্চায় অভ্যন্তরীণ বিতর্ক ও তারুণ্যের বাগ্মিতা শাণিত করার লক্ষ্যে আমরা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটি সবসময় কাজ করে যাচ্ছি। প্রতি বছরের ন্যায় এবার ও আমাদের ৩৬ টি বিভাগ নিয়ে আন্তঃবিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। করোনা মহামারীর কারনে এবার আমরা অনলাইনে এই আয়োজন টি করব।'

ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি, নোবিপ্রবি'র দুই শিক্ষার্থীর বহিষ্কার

 ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি, নোবিপ্রবি'র দুই শিক্ষার্থীর বহিষ্কার

নোবিপ্রবি প্রতিনিধিঃসামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি করায় নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের পরিবেশ বিজ্ঞান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী প্রতিক মজুমদার ও একই শিক্ষাবর্ষের ফার্মেসি বিভাগের শিক্ষার্থী দীপ্ত পালকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 

আজ বুধবার(২৮ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশের  মাধ্যমে তাদের বহিষ্কার করা হয়। অফিস আদেশে বলা হয়, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত এবং বাংলাদেশ সরকারের আইন মোতাবেক দন্ডনীয় অপরাধ করায় তাদের বিশ্ববিদ্যালয় হতে সাময়িক বহিষ্কার এবং হলের সিট বাতিল করা হয়েছে। সেই সাথে কেন তাদের স্থায়ী ভাবে বহিষ্কার করা হবে না এবং আইসিটি আইনে মামলা হবে না, তা নিয়ে আগামী ২ নভেম্বরের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার বরাবর কারণ দর্শানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বৃহত্তর কুমিল্লার রাজনৈতিক গুরু আবদুল আউয়াল সাহেবের ১৩ তম মৃত্যু বার্ষিকী

 বৃহত্তর কুমিল্লার রাজনৈতিক গুরু আবদুল আউয়াল সাহেবের ১৩ তম মৃত্যু বার্ষিকী

মোঃ রবিউল হোসাইন সবুজ, লাকসাম কুমিল্লা প্রতিনিধিঃআজ (২৮শে অক্টোবর) ২০২০ তারিখে জাতির জনকের প্রিয়, ভাই আউয়াল সাহেবের ১৩ তম মৃত্যু বার্ষিকী।আব্দুল আউয়াল (১৯২১-২০০৭) চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি থানার অন্তর্গত চেঙ্গাচাল নামক এক নিঝুম গ্রামের মুসলিম সম্ভ্রান্ত পরিবারে ১ জুলাই ১৯২১ সালে জন্মগ্রহণ করেন।তাঁহার মাতার নাম ছায়েদা খাতুন। পিতা মৌলভী ছাঈয়েদ আহমদ।একনজরে আবদুল আউয়ালের সংগ্রামী দিনগুলিঃগণ-পরিষদ সদস্য মরহুম আব্দুল আউয়াল ১৯৩৮ সালে মাত্র ১৭ বছর বয়সে ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনে জড়িত হন।১৯৩৮ সালে লাকসাম উপজেলা মুসলীম ছাত্রলীগে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন।১৯৩৯ সালে লাকসাম উপজেলা মুসলীম ছাত্রলীগের অস্থায়ী সভাপতি এবং১৯৪০ সালে লাকসাম উপজেলা মুসলীম ছাত্রলীগের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বপালন করেন।১৯৪১ সালে পাকিস্তান দিবস পালনের উদ্দেশ্যে হাজার লোকের স্বাক্ষর সংগ্রহ করেছেন। এজন্য ব্রিটিশ সরকারের রোষানলে পড়ে তাহার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান লাকসামের গাজীমুড়া আলীয়া মাদ্রাসা হতে বহিষ্কৃত হন।১৯৪২ সালে ত্রিপুরা সদর দক্ষিণ মহকুমা মুসলিম ছাত্রলীগেরসাধারণ সম্পাদক ছিলেন এবং একই সময়১৯৪২ সালে বৃহত্তর কুমিল্লা জিলা মুসলিম ছাত্রলীগের সভাপতি ও বঙ্গীয় প্রাদেশিক মুসলিম ছাত্রলীগ কাউন্সিলর সদস্য ছিলেন।১৯৪৩ সালে ত্রিপুরা দক্ষিণ মহকুমা মুসলিম লীগ সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।১৯৪৩ সালে ত্রিপুরা জেলা মুসলিম লীগ ও বঙ্গীয় প্রাদেশিক মুসলিম লীগ কাউন্সিলর সদস্য হিসেবে কলকাতায় অনুষ্ঠিত প্রাদেশিক মুসলিম লীগ কাউন্সিলের প্রতিটি সভায় যোগদান করেন।

১৯৪৫ সালে চাঁদপুর জেলার কচুয়া থানার অন্তর্গত রহিমানগর বাজারে এক জনসভায় -’শয়তানের হুকুমতের কবর দিয়ে তার উপর পাকিস্তানের সৌধ নির্মাণ করিতে চলিলাম’- বলিয়া বক্তৃতা আরম্ভ করিলে ব্রিটিশ সরকার তাকে সর্ব প্রথম গ্রেফতার করেন।১৯৪৯ সালে লাকসাম উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।১৯৫৩ সালে মহকুমা আওয়ামীলীগ সম্পাদক, বৃহত্তর কুমিল্লা জিলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক ও প্রচার সম্পাদক নির্বাচিত হন।১৯৪৯ সালে মিস্ ফাতেমা জিন্নার নির্বাচন কালে তাকে মিথ্যা মাইক চুরির মামলায় গ্রেপ্তার করে এক মাস স্ব-গৃহে অন্তরীন রাখা হয়।

পূর্ব-পাকিস্তানে মুসলিম ন্যাশনাল গার্ড -এর সংখ্যা যখন ছিল প্রায় চার লক্ষ, তখন শুধুমাত্র আব্দুল আউয়াল একাই কঠোর পরিশ্রমে তিলে তিলে গড়ে তুলেছিলেন প্রায় পনের হাজার ন্যাশনাল গার্ড বাহিনী আর হাজার হাজার ছাত্র-কর্মী।আবদুল আউয়াল লাকসামে বঙ্গবন্ধু শেখ্ মুজিবুর রহমান-কে নিয়ে ১৮/০৪/১৯৫৫ সাল, ১৯৫৬ সাল, ২৫/০২/১৯৫৭ সাল, ০১/১১/১৯৬৪ সাল এবং ১২/১২/১৯৬৪ সালে জনসভা আয়োজন করেছিলেন যার অসংখ্য লিফলেট ও প্রমানাদি রয়েছে, যা স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে সংরক্ষিত আছে। এ ক্ষেত্রে আব্দুল আউয়ালকে মুক্তিযুদ্ধের একজন ইতিহাস সংগ্রাহক হিসেবে বিবেচনা করা যায় নিঃসন্দেহে।১৯৭৪ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ্ মুজিবুর রহমান গণভবনে বৃহত্তর কুমিল্লা জেলা আওয়ামীলীগের কমিটি গঠন করে আব্দুল আউয়াল-কে সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব অর্পণ করেন। তিনি উক্ত পদে ১৯৮৪ সাল অবধি জেলা আওয়ামীলীগের দায়িত্ব পালন করেন।দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের পথ পাড়ি দিতে গিয়ে নিজের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসা-বানিজ্য এমনকি ঘর-সংসার করার কথাটিও ভাবার সময় পাননি। ১৯৭৬ সালে মায়ের শেষ অনুরোধ রক্ষার্থে ৫৫ বছর বয়সে লাকসামের মিশ্রী গ্রাম নিবাসী শহীদ বুদ্ধিজীবি ডাঃ গোলাম মোস্তফার বিপত্নীক ছোট বোনকে বিয়ে করেন।২৮ অক্টোবর ২০০৭ তারিখ ভোরের প্রথম প্রহরে লাকসামের নিজ বাসভবনে ইতিহাসের এই মহান ব্যক্তিটি চির বিদায় নেন। যাকে উদ্দেশ্য করে বঙ্গবন্ধু ১৯৬৫ সালে আব্দুল আউয়াল-কে লেখা অনেকগুলো চিঠির মধ্যে একটিতে লিখেছিলেন-ভাই আউয়াল, আপনার নিঃস্বার্থ ত্যাগের কথা সকলে ভুলতে পারে কিন্তু আমি ভুলতে পারিনা।’আবদুল আউয়ালের লাকসামের বাসভবনে বঙ্গবন্ধু কন্যা পিতার হাতের লেখা সেই চিঠিগুলো পড়ে চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি।

তথ্য সূত্রঃ- আতাউল করিম জুন্নুন।

মাকিহারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেনের সংবাদ সম্মেলন

মাকিহারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আফজাল হোসেনের সংবাদ সম্মেলন



মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ  সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রধান শিক্ষক এ.কে,এম ফজলুল হকের  মিথ্যা ও বানোয়াট বক্তব্য প্রদানের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন দিনাজপুর সদরের মাকিহারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো: আফজাল হোসেন।

২৭ অক্টোবর মঙ্গলবার  দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করছেন সদরের মাকিহারী উচ্চ বিদ্যারয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো: আফজাল হোসেন। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন,সদরের ১০ নং কমলপুর ইউনিয়নের মাকিহারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রধান শিক্ষক এ.কে.এম ফজলুল হক সংবাদ সম্মেরন করে মিথ্যা ও বানোয়াট এবং বিভ্্রান্তিকর তথ্য সংবাদ সম্মেলন করেছে। তিনি বলেন, তার দেয়া মিথ্যা তথ্যের ভিক্তিতে পরিবেশিত হাইকোর্টের আদেশ আদেশ অমান্য করে শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন ভাতা বন্ধ করা হয়েছে শীর্ষক শিরোনামে বিভিন্ন পত্রিকায় ও অনলাইন সংবাদ মাধ্যমগুলোতে প্রচারিত সংবাদটি আদৌ সত্য নয়।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়েছে,সাময়িক বরখাস্ত হওয়া প্রধান শিক্ষক এ.কে.এম ফজলুল হক ১৯৯৬ সালে ৩৬ জন এসএসসি পরিক্ষার্থীর নিকট ফরম পুরুনের যাবতীয় টাকা বোর্ডে জমা না দিয়ে বাড়ি থেকে পলাতক ছিলেন। যে কারনে ওই ৩৬ জন পরিক্ষার্থ সেবার বোর্ড পরিক্ষায় অংশ নিতে পারেনি। উক্ত অপরাধের কারনে ততকালিন বিদ্যালয় কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রধান শিক্ষক এ.কে.এম ফজলুল হক সাময়িক বরখাস্ত করেন এবং বিভাগীয় ব্যবস্থাগ্রহনের জন্যে মন্ত্রনালয়ে চিঠি দিলে শিক্ষক ফজলুল হকের এমপিও বাতিল হয়ে যায়। এব্যাপারে বরখাস্ত হওয়া শিক্ষক ফজলুল হক বরখাস্তের বিরুদ্ধে এবং এমপিও ফিরে পেতে ২টি মামলা দায়ের করেন যার নং ৫/৯৬ অন্য এবং ২৬১/২০০০ অন্য,মামলা স্বাক্ষির অভাবে ৬ বছর পরে খারিজ করেন আদালত। এছাড়াও দূর্নীতি পরায়ণ ফজলুর হক স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব হুসেন আলীর পুত্র মো: সাদেক আলীকে অত্র বিদ্যালয়ে শিক্ষক পদে চাকুরী দেয়ার নামে নিজের চেক জামানত রেখে ১০ লাখ ৫০ হাজার টাকা ঘুষ নেন। চাকুরী দিতে ব্যার্থ হলে হুসেন আলী তার বিরুদ্ধে দিনাজপুর অর্থ ঋন আদালতে মামলা করেন যার নং ৯৭৬/২০১৯।

সহকারী শিক্ষক খায়রুর ইসলামের বিরুদ্ধে ডিগ্রী সার্টিফিকেট জালের মিথ্যা অভিযোগও করেছেন ফজলুল হক অথচ বরখাস্ত হওয়া ফজলুল হকের নিজস্ব বি.এড সনদপত্রটি ভুয়া। দারুল এহসান নামে দিনাজপুরে কোনো ক্যাম্পাস নেই তিনি এই ক্যাম্পাসের জাল সনদ দিয়ে এতদি চাকুরী করছিলেন। এব্যাপারেও জেলা শিক্ষা অফিস থেকে তার সনদ যাচাইয়ের জন্য চিঠি দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও ফজলুল হক ২০১৯ সালের শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অডিট সংক্রান্ত যে বিষয় উল্লেখ করেছে ওই অডিটের নিরীক্ষা রির্পোট কর্তৃপক্ষ এখনো প্রদান করেনি এবং শিক্ষক সর্ম্পকে মৌখিক কোনো মন্তব্যও করেননি। 

অথচ হিংসাত্বক মনোভাব নিয়ে বরখাস্তকৃত ফজলুল হক অর্থ আত্বসাতের জন্য শিক্ষক মো: খায়রুল ইসলাম ও মো: সাইদুর রহমানকে অতিরিক্ত অর্থ ফেরত চেয়ে উকিল নোটিশ প্রদান করেছে যা সম্পূর্ন্ন বিধি বর্হিভ’ত। ৪জন শিক্ষকের বেতনের ব্যাপারে আমরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জেলা শিক্ষা অফিসার ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বরাবরে আবেদন করলে তারা শিক্ষকদের বেতর বিল প্রদানের জন্য প্রধান শিক্ষককে লিখিত নির্দেশ প্রদান করেন সেটিও বরখাস্ত প্রধান শিক্ষক অগ্রাহ্য করেছে। এরপরে দিনাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো: মনিরুজ্জামানকে সভাপতি নিযুক্ত করে ১ জুলাই ২০২০ নীতিমালা বর্হিভুত ভাবে এডহক কমিটি অনুমোদন দেন । প্রধান শিক্ষকের অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই। এডহক কমিটি গঠন নীতিমালা ৩৯ এর ধারা উপধারা যথাযথ অনুসরণ করে এডহক কমিটি গঠন ও অনুমোদিত হয়। উক্ত প্রবিধানে উল্লেখ আছে যে,এডহক কমিটির সভাপতি হবে বোর্ড কর্তৃক মনোনিত হয়। সেখানে অন্য কোন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সভাপতি হতে পারবেনা এমন কোনো কিছু উল্লেখ নাই।

সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রধান শিক্ষক এ,কে.এম ফজলুল হকের অভিযোগ ১২ জুলাই ২০২০ইং তারিখে কারণ ছাড়াই তাকে নিয়ম বর্হিভুত ভাবে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় এবং ২জন শিক্ষক মো: খায়রুল ইসলাম ও মো: সাইদুল ইসলামকে র্পূন:বহাল করা হয়। এই অভিযোগও সত্য নয় বরং তার দূর্নীতি ও সভাপতির আদেশ অমান্য করায় প্রবিধান যথাযথ অনুসরণ করে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় এবং অপর ২জন শিক্ষকের অপরাধ প্রমানিত না হওয়ায় তাদের বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রধান শিক্ষকের প্রত্যয়নে অবৈধ দাতা সদস্য কায়ুইম সরকার বাদী হয়ে সভাপতির বিরুদ্ধে হাইর্কোটে রীট পিটিশন করেন। উক্ত রীট পিটিশনেও সভাপতি মো: মুনিরুজ্জামান(সহকারী শিক্ষক)সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,প্রতিষ্ঠাতা ও জমিদাতা সদস্য আলহাজ্ব হোসেন আলী,স্কুল কমিটির সাবেক সদস্যবৃন্দ যতাক্রমে মো: মোস্তাফিজুর রহমান,রইসুল ইসলাম, আব্দুল মান্নান, নজরুল ইসলাম,ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব সামসুদ্দীন ও ছাত্র অভিভাবক সামসুল হক।

দিনাজপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর অতিদরিদ্র খানাসমূহে জরুরী সহায়তা প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন

দিনাজপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর অতিদরিদ্র খানাসমূহে জরুরী সহায়তা প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন


মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরে কোভিড-১৯ এর ফলে সৃষ্ট সংকট থেকে উত্তরণের লক্ষ্যে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর অতিদরিদ্র পরিবারসমুহের মাঝে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে জরুরী সহায়তা প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। ২৭ অক্টোবর ২০২০ মঙ্গলবার  জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের সভা কক্ষে প্রধান অতিথি হিসেবে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. শরিফুল ইসলাম। এসময় গ্রাম বিকাশ কেন্দ্র’র (জিবিকে) বাস্তবায়নে, পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) সহযোগিতায় ও জেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় জরুরী সহায়তা কার্যক্রমে ১ম পর্যায়ে উপস্থিত ১০ জন উপকারভোগী সদস্যের প্রত্যেককে ৩ হাজার টাকা নগদ মোবাইল ব্যাকিং এর মাধ্যমে প্রদান করেন তিনি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারি কমিশনার (গোপনীয় শাখা) ইমদাদুল হক শরীফ, গ্রাম বিকাশ কেন্দ্রের উপ-প্রধান নির্বাহী আমিনুল ইসলাম, পরিচালক (সামাজিক উন্নয়ন) সারা মারান্ডি, প্রসপারিটি প্রোগ্রামের প্রোগ্রাম ম্যানেজার আব্দুস সালাম।আয়োজকরা জানান, পিকেএসএফ-প্রসপারিটি কর্তৃপক্ষ গ্রাম বিকাশ কেন্দ্র (জিবিকে) কর্তৃক ইতোমধ্যে চিহ্নিত অতিদরিদ্র খানাসমূহকে কোভিড-১৯ সংকট এর সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষার লক্ষ্যে প্রসপারিটি প্রকল্পের আওতায় ঊসবৎমবহপু অংংরংঃধহপব চৎড়মৎধসসব (ঊঅচ) বা জরুরী সহায়তা কার্যক্রম গ্রহন করেছে। গ্রাম বিকাশ কেন্দ্র পাইলটিং ৩টি ইউনিয়নে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ১ হাজার ৭শ ২২ টি অতিদরিদ্র পরিবারে জরুরী সহায়তা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবে। তবে প্রাথমিকভাবে গত আগষ্ট’ ২০২০ ইং মাসে পাইলটিং হিসেবে বিনোদনগর ইউনিয়নের পূর্ব জয়দেবপুর গ্রামের ১শ ১২ টি খানার মধ্য থেকে চূড়ান্তভাবে ৯৪ টি খানায় ৫শ টাকা হিসেবে মোট ৪৭ হাজার টাকা এই নগদ মোবাইল ব্যাকিং প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সফলভাবে জরুরী সহায়তা দেয়া হয়েছে। নগদ মোবাইল ব্যাকিং এর মাধ্যমে এই টাকা ট্রান্সফার করার লক্ষ্যে গ্রাম বিকাশ কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ নগদ কোম্পানীর এর সাথে একটি সমঝোতা স্মারক সম্পন্ন করে যার ফলশ্রুতিতে উপকারভোগীগণকে ৫০০ টাকায় ৫ টাকা ক্যাশ আউট ফি দিতে হয় যা বিকাশ/রকেট থেকে সাশ্রয়ী। ইতোমধ্যে নগদ থেকে সরবরাহকৃত ডিসবার্সমেন্ট রিপোর্ট (ট্রানজাকশন আইডিসহ) পিকেএসএফ কর্তৃপক্ষকে প্রদান করা হয়েছে। পাইলটিং সফল হওয়ার ফলে বাকী ৯৪ টি খানায় মাস ভিত্তিক ৩টি ধাপের ১ম ধাপের বাকী ২৫০০ টাকা দেয়া হবে। প্রসপারিটি প্রকল্প কর্তৃক চিহ্নিত ও নির্বাচিত প্রতিটি খানা ৩ হাজার টাকা করে আগামী ৩ মাসে মোট ৯ হাজার টাকা পাবেন। উল্লেখ্য, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও তিনি জরুরী কাজে রংপুর অবস্থান করায় তার পরিবর্তে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সাবির্ক) এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

লোহাগড়া থানার এএসআই তপনের অভিনব কায়দায় আসামি গ্রেফতার

লোহাগড়া থানার এএসআই তপনের অভিনব কায়দায় আসামি গ্রেফতার



মো: আজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার নড়াইল।।নড়াইলের লোহাগড়া থানা পুলিশের অভিনব কায়দার অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামিকে কৃষক ও ইমাম সেজে গ্রেপ্তার করেছেন এএসঅাই তপন,ও কনস্টেবল রাকিব,২৭/১০/২০ তারিখ :মঙ্গলবার  সন্ধ্যা ৬ টার দিকে লোহাগড়া উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের তার নিজ গ্রাম সারুলিয়া থেকে তাকে গ্রেফতার করেন।এএস আই তপন বলেন, মো:  শাহিন সাজাপ্রাপ্ত আসামী সে দীর্ঘদিন ধরে কৌশলে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন, তারে নামে অদ্য ২৭/১০/২০ খ্রিস্টাব্দে কুমিল্লা চৌদ্দ গ্রাম থানার জিআর নং২২০/১৮ তাকে আদালত ৬ মাসের সাজা ও আর্থিক জরিমানা করেন।এএসআই তপন আরো বলেন আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

লাকসাম জাতীয় স্যানিটেশন ও বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত হয়

 লাকসাম জাতীয় স্যানিটেশন ও বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত হয়



মোঃ রবিউল হোসাইন সবুজ,লাকসাম,কুমিল্লা প্রতিনিধিঃজাতীয় স্যানিটেশন মাস এবং বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস উপলক্ষ্যে বর্নাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়।" উন্নত স্যানিটেশন নিশ্চিত করি ও করোনাভাইরাস মুক্ত দেশ গড়ি’" এই প্রতিবাদ্যকে সামনে রেখে লাকসাম পৌরসভায় জাতীয় স্যানিটেশন মাস এবং বিশ্ব হাত ধোয়া দিবসে এক বর্নাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত।(২৮শে, অক্টোবর) বুধবার সকাল ১১ টায় লাকসাম পৌরসভা এর আয়োজনে তৃতীয় নগর পরিচালক ও অবকাঠামো উন্নতিকরন প্রকল্প   (UGIIP-III) সহ স্থানীয় সরকার,  জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর (DPHE)কর্মসূচি এর সহযোগিতায় জাতীয় স্যানিটেশন মাস এবং বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস উপলক্ষে পৌরসভার পরিষদে চত্বরে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি শহরের প্রদান প্রদান সড়ক প্রদক্ষিণ করে, লাকসাম পৌরসভার সম্মানিত মেয়ের অধ্যাপক আবুল খায়েরের সভাপতিত্বে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।  এসময় উপস্থিত ছিলেন, লাকসাম পৌরসভার সম্মানিত  কমিশনার মোঃ বাহার উদ্দিন ,শাহনাজ মজুমদার, আব্দুল আলিম দিদার ও পৌরসভার  কর্মকর্তা মোঃ রঞ্জুর, সোহেল, সবুজসহ  অনুষ্ঠানে জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, শিক্ষক, এনজিও প্রতিনিধি এবং সুশিল সমাজের লোকজন উপস্থিত ছিলেন। পরে হাত ধোয়ার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তী ঘটে।

সিএমপি ডিবি (বন্দরওপশ্চিম) কর্তৃক সাড়াশি অভিযান, গ্রেফতার ২০

সিএমপি ডিবি (বন্দরওপশ্চিম)  কর্তৃক সাড়াশি  অভিযান, গ্রেফতার ২০



চট্টগ্রাম প্রতিনিধি, হাসান রিফাতঃগত(২৭/১০/২০২০ খ্রীঃ) রাত ১১ ঘটিকায় মহানগর গোয়েন্দা (বন্দরওপশ্চিম) বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি-পশ্চিম), জনাব মোহাম্মদ মনজুর মোরশেদ এর দিক নির্দেশনায়, অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি-বন্দর) জনাব মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক এর নেতৃত্বে, সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি-পশ্চিম) কাজল কান্তি চৌধুরী, সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি-বন্দর) জনাব মোঃ গোলাম ছরোয়ার, পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ), জনাব মোহাম্মদ মাহবুবুল আলম, পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ), জনাব মোহাম্মদ শাহাদাৎ হোসেন খান ও পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ), জনাব মোঃ জাহিদুল কবির সহ টিম-১১, ,১৫, ১৬,১৮ এর যৌথ অভিযানে চট্টগ্রাম মহানগরীর ডবলমুরিং,ইপিজেড, বন্দর ও হালিশহর এলাকার  বিভিন্ন জুয়ার স্পটে অভিযান পরিচালনা করে ২০ জন জুয়াড়িকে নগদ ৩০,১৬০/- (ত্রিশ হাজার একশত ষাট) টাকা ও জুয়া খেলার সরঞ্জামাদিসহ আটক করে মহানগর গোয়েন্দা (বন্দরওপশ্চিম) বিভাগ। 

গ্রেপ্তারকৃত জুয়াড়িদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে আজ আদালতে প্রেরণ করা হবে এবং এসব জুয়াড়িদের পেছনে যারা মদদ দিচ্ছে তাদেরকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

হরিণাকুন্ডে বিএনপির সাবেক সভাপতি আবুল হোসেনের সপ্তম মৃত্যু বার্ষিকী পালন

 হরিণাকুন্ডে বিএনপির  সাবেক সভাপতি  আবুল হোসেনের সপ্তম মৃত্যু বার্ষিকী পালন


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃহরিনাকুণ্ডু উপজেলা বিএনপি'র সাবেক সভাপতি, ৪ নং দৌলতপুর ইউনিয়নের বার বার নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত, আবুল হোসেন এর সপ্তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে মরহুমের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে হরিনাকুন্ডু উপজেলা ও পৌর বিএনপি। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক ঝিনাইদহ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি ও আইনজীবী সমিতির একাধিকবার নির্বাচিত সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি'র আহবায়ক, বীর মুক্তিযোদ্ধা,অধ্যক্ষ, জননেতা এ্যাডঃ এম এম মশিয়ুর রহমান।

ঝিনাইদহ ২ আসনের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী, হরিনাকুণ্ডু উপজেলা পরিষদের সাবেক সুযোগ্য সফল চেয়ারম্যান, সাবেক ছাত্রনেতা ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব, জননেতা আলহাজ্ব এ্যাডঃ এম এ মজিদ। হরিনাকুণ্ডু উপজেলা বিএনপি'র আহবায়ক, মোঃ আবুল হাসান মাস্টার, হরিনাকুণ্ডু পৌর বিএনপির আহবায়ক, মোঃ জিন্নাতুল হক খাঁন। হরিনাকুণ্ডু উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক,মোঃ মোজাম্মেল হক, জেলা বিএনপি'র সদস্য ও জেলা যুবদলের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক, মোঃ আশরাফুল ইসলাম পিন্টু, পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ আলতাফ হোসেন, হরিনাকুন্ডু উপজেলা বিএনপি'র যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ তাইজাল হোসেন। হরিনাকুণ্ডু উপজেলা বিএনপি'র যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ  আনিচুর রহমান, পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ মতিউর রহমান ওহিদ, হরিনাকুণ্ডু উপজেলা বিএনপি'র যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ আব্দুল মোমিন, পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ আশরাফুল আলম টোটন, উপজেলা বিএনপি'র সদস্য, ৪ নং দৌলতপুর ইউনিয়নের বিএনপি'র সভাপতি,মোঃ সামছুল আলম, দৌলতপুর ইউনিয়ন বিএনপি'র সাধারন সম্পাদক, মোঃ আনিচুর রহমান, সহ বিএনপি ও সকল অঙ্গওসহযোগী সংগঠনের অগনিত নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বর্তমান সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে বদ্ধ পরিকর-আ.ন.ম সেলিম

 বর্তমান সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে বদ্ধ পরিকর-আ.ন.ম সেলিম


সেলিম চৌধুরী,স্টাফ রিপোর্টারঃ-  চট্টগ্রামে পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আ.ন.ম সেলিম বলেছেন, বর্তমান সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে বদ্ধ পরিকর। দেশরত্ম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পটিয়াসহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে দৃশ্যমান উন্নয়ন কাজ হয়েছে। পটিয়ার এমপি ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর আন্তরিক প্রচেষ্টা এবার শারদীয় দূর্গা পূজা উদযাপিত হয়েছে। ২৬ আক্টোবর (সোমবার) বিজয়াদশমীতে পটিয়ার শোভনদন্ডীতে পুজামন্ডপে অনুদান প্রদানকালে আ.ন.ম. সেলিম উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন শোভদন্ডী ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. গোলাম কিবরিয়া, আ’লীগ নেতা সুনিল চৌধুরী, নুরুল হক মেম্বার, জয়নুল আবেদীন ঝুমন, বজলুল রহমান ওয়াহেদ, আয়ুব খান, আবুল কাশেম, বিধান মাস্টার, বাবুল মিত্র, প্রদীপ চৌধুরী, বদিউল আলম, এমদাদ হোসেন মিন্টু, যুবলীগ নেতা রবিউল ইসলাম, জুয়েল খান, নুরুল আলম, জালাল উদ্দিন, ছাত্রলীগ নেতা মো. ইকবাল হোসেন, কায়সার আলম, যুবলীগ নেতা আবেদুর রহমান, সুমন উদ্দিন, আরাফাত হোসেন, রহমান, আমির হোসেন। শোভদন্ডী ইউনিয়নের কুরাংগিরি, শোশাং, মহাজন বাড়ি, হিলচিয়া, লাওয়ারখীলসহ ১০টি পূজামন্ডপে আর্থিক অনুদান করা হয়। অনুদান প্রদানকালে জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরেন।

বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ হামিদুর রহমানের ৪৯ তম মৃত্যু বার্ষিক আজ

  বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ হামিদুর রহমানের ৪৯ তম মৃত্যু বার্ষিক আজ

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃ ১৯৭১ এর ২৮ অক্টোবর  বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান শহীদ হন। ৪৯ তম মৃত্যু বার্ষিক আজ। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে চরম সাহসিকতা আর অসামান্য বীরত্বের স্বীকৃতিস্বরূপ যে সাতজন বীরকে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সামরিক সম্মান ‘বীরশ্রেষ্ঠ’ উপাধিতে ভূষিত করা হয় তার মধ্যে ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার খর্দখালিশপুরে (বর্তমান হামিদনগরে) জন্ম নেওয়া হামিদুর রহমান অন্যতম। মাত্র ১৮ বছর বয়সে শহীদ হওয়া হামিদুর রহমান ওই সাতজনের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ।

সিলেটের শ্রীমঙ্গল থানার সীমান্তবর্তী হানাদারবাহিনীর একটি আউটপোস্ট দখলের জন্য প্রথম ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের সি কোম্পানির হয়ে অপারেশনে অংশ নেন হামিদুর রহমান। মুক্তিবাহিনী আউটপোস্টটির খুব কাছাকাছি পৌঁছালেও শত্রুর ভারী মেশিনগানের গুলিবর্ষণে আর অগ্রসর হওয়া যাচ্ছিল না। তখন মেশিনগান পোস্টে গ্রেনেড চার্জের দ্বায়িত্ব দেওয়া হয় কম বয়সী হামিদুর রহমানকে। তিনি পাহাড়ি খালের মধ্য দিয়ে বুকে হেঁটে মেশিনগান পোস্টে গ্রেনেড চার্জ করেন। দু’টি গ্রেনেড টার্গেটে আঘাত হানে। কিন্তু তা করতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হন তিনি। এ অবস্থাতেই তিনি দু’জন পাকিস্তানি সৈন্যের সঙ্গে হাতাহাতি যুদ্ধ শুরু করেন। হামিদুর রহমানের অসীম সাহসিকতা ও বীরত্বের কারণে সেদিন মুক্তিবাহিনী শত্রুকে পরাস্ত করতে সক্ষম হয়েছিল। কিন্তু তিনি গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

যুব অধিকার পরিষদের বরিশাল বিভাগীয় উপকমিটি গঠিত

 যুব অধিকার পরিষদের বরিশাল বিভাগীয় উপকমিটি গঠিত



মোঃ আওলাদ হোসেন, জেলা প্রতিনিধি ভোলা (দৌলতখান) আজ বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০ইং  বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদের বরিশাল বিভাগীয় উপকমিটির কাজ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বিভাগীয় কমিটিতে দায়িত্বশীল সহ সূধী ও সাধারণ মানুষসহ সবাই ঢাকসুর সদ্য বিদায়ী ভিপি ও যুব অধিকার পরিষদের কর্নধার নুরুল হক নুরুকে স্বাগতম ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। 

ভোলা চরফ্যাশন থেকে বরিশাল উপ বিভাগীয় কমিটিতে দায়িত্ব প্রাপ্ত সাইদুল ইসলাম (কেন্দ্রীয় সদস্য) বলেন, ভিপি নুরুল হক নুরু ভাই আমাকে যে দায়িত্ব দিয়েছেন আমি যেন তা সঠিক ভাবে পালন করতে পারি সেই জন্য সবার সহযোগিতা ও ভালোবাসা কামনা করছি।

ইউনিয়ন পর্যায়ে কমিউনিটি সাপোর্ট গ্রুপ এর প্রশিক্ষণ প্রদান

ইউনিয়ন পর্যায়ে  কমিউনিটি সাপোর্ট গ্রুপ এর প্রশিক্ষণ প্রদান

স্টাফ রিপোর্টার: জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় স্বাস্থ্যসেবাকে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে কমিউনিটি ক্লিনিকের কাজকে আরও সহজতর করতে ইউনিয়ন পর্যায়ে কমিউনিটি সাপোর্ট গ্রুপ এর প্রশিক্ষণ প্রদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয় আজ।

যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়নের আটলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আজ বুধবার সকাল ৯ ঘটিকা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত এই প্রশিক্ষণ চলে। এ প্রশিক্ষণে আটলিয়া কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি মাহবুবুর রহমান এর পরিচালনায় এবং ৩ নম্বর ওয়ার্ডের আটলিয়া গ্রামের ইউপি সদস্য মফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন শরাফত হোসেন ইপিআই টেকনিশিয়ান ঝিকরগাছা ,আয়েশা খাতুন এইচ,এ ,তহমিনা খাতুন এস ডব্লু এ সহ কমিটির সদস্য ও কর্মকর্তাবৃন্দ।

উক্ত প্রশিক্ষণ শেষে সকলকে একটি কমিউনিটি ক্লিনিক এর মনোগ্রাম সংবলিত ছাতা ও সম্মানী প্রদান করা হয়।

খতিয়ান মোঃ রাসেল মিয়া

  খতিয়ান               মোঃ রাসেল মিয়া

হাত বাড়ালেই মুঠো ভরে যায় ঋণে

অথচ আমার শস্যের মাঠ ভরা।

রোদ্দুর খুঁজে পাই না কখনো দিনে,

আলোতে ভাসায় রাতের বসুন্ধরা।

টোকা দিলে ঝরে পচা আঙুলের ঘাম,

ধস্ত তখন মগজের মাস্তুল

নাবিকেরা ভোলে নিজেদের ডাক নাম

চোখ জুড়ে ফোটে রক্তজবার ফুল।

ডেকে ওঠো যদি স্মৃতিভেজা ম্লান স্বরে,

উড়াও নীরবে নিভৃত রুমালখানা

পাখিরা ফিরবে পথ চিনে চিনে ঘরে

আমারি কেবল থাকবে না পথ জানা–

টোকা দিলে ঝরে পড়বে পুরনো ধুলো

চোখের কোণায় জমা একফোঁটা জল।

কার্পাস ফেটে বাতাসে ভাসবে তুলো

থাকবে না শুধু নিবেদিত তরুতল

জাগবে না বনভূমির সিথানে চাঁদ

বালির শরীরে সফেদ ফেনার ছোঁয়া

পড়বে না মনে অমীমাংসিত ফাঁদ

অবিকল রবে রয়েছে যেমন শোয়া

হাত বাড়ালেই মুঠো ভরে যায় প্রেমে

অথচ আমার ব্যাপক বিরহভূমি

ছুটে যেতে চাই– পথ যায় পায়ে থেমে

ঢেকে দাও চোখ আঙুলের নখে তুমি।

স্বাস্থ্য বিধি মানা শর্তে ১লা নভেম্বর থেকে খুলে দেয়া হচ্ছে সুন্দরবনের সকল পর্যটন কেন্দ্র

স্বাস্থ্য বিধি মানা শর্তে  ১লা নভেম্বর থেকে খুলে দেয়া হচ্ছে সুন্দরবনের সকল পর্যটন কেন্দ্র



মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃস্বাস্থ্য বিধি মানা শর্তে আগামী ১লা নভেম্বর থেকে খুলে দেয়া হচ্ছে সুন্দরবন বনের সকল পর্যটন স্পট। সুন্দরবন খুলে দেয়ার জন্য ইতিমধ্যে বন অধিদপ্তর একটি গেজেট  প্রণয়ন করেছেন। গেজেট সম্পন্নের পর মঙ্গলবার বনবিভাগের প্রধান কার্যালয় (ঢাকা) থেকে বনের সকল পর্যটন কেন্দ্র খুলে দেয়ার বাতার্ পৌঁছে দেয়া হয়েছে বনবিভাগের খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট ও মোংলাসহ সকল জায়গায়। বনবিভাগের প্রধান বন সংরক্ষক মো: আমির হোসাইন চৌধুরী মঙ্গলবার রাত সোয়া ১০টার দিকে এ সিদ্ধান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, অবশ্যই স্বাস্থ্য বিধি মেনেই পর্যটকদের বনে ভ্রমণ করতে হবে। এজন্য বনবিভাগের বিভিন্ন কার্যালয়ে নিদের্শনা পাঠানো হয়েছে। এছাড়া করোনাকালে এক সাথে বেশি লোকজন নিয়ে ভ্রমণ করা যাবেনা। মানতে হবে সামাজিক ও শারিরীক দূরত্বও। সেই সেত্রে অবশ্যই পর্যটন ব্যবসায়ীদেরকে সতর্কতাবস্থানে থাকতে হবে। চলতি বছরের ১৯ মার্চ করোনা প্রাদুভার্বের কারণেই সুন্দরবনে পর্যটকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এরপর থেকে বেকার হয়ে পড়ে এ শিল্পের সাথে জড়িত পর্যটন ব্যবসায়ী, মালিক ও শ্রমিক-কর্মচারীরা। তারা সুন্দরবন পর্যটনদের জন্য খুলে দেয়ার দাবীতে মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচীও পালন করে আসছিল। তারপর থেকে দীর্ঘ প্রায় ৭ মাসেরও অধিক সময় পেরিয়ে যাওয়ার পর বনবিভাগ নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে আগামী ১লা নভেম্বর থেকে সুন্দরবন ভ্রমণের জন্য উম্মুক্ত করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ সিদ্ধান্তের সাথে সাথে পর্যটন কেন্দ্রগুলোর বিভিন্ন স্থাপনার উন্নয়ন, সংস্কার ও মেরামতে কাজ শুরুও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। কারণ বিগত ঝড়-জলোচ্ছাসে বনের প্রধান আকর্ষণীস্থান করমজলসহ বিভিন্ন কেন্দ্রের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। একই সাথে প্রস্তুতিও নিতে শুরু করেছেন ট্যুরিজম ব্যবসায়ীরা। তারা তাদের নৌযানগুলোকে মেরামতসহ নাান কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। করোনাকালে বেশ ক্ষতি হয়েছে বনবিভাগ ও ট্যুরিজম ব্যবসায়ীদের। বন্ধ থাকায় আর্থিক ক্ষতি হয়েছে সকলেরই। এ বিষয়ে করমজল পর্যটন কেন্দ্র ও বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ইনচার্জ মো: আজাদ কবির বলেন, বন্ধের ৭ মাসে কম হলেও অন্তত প্রায় ১০ লাখ টাকা রাজস্ব আয় হতো এখান থেকে। ঠিক অন্যান্য কেন্দ্রগুলো থেকেও বেশ পরিমাণ রাজস্ব হতো, করোনা দুযোর্গের কারণে সেই ক্ষতিটাতো বনবিভাগের হয়েই গেছে। 

ট্যুরিজম ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান মিজান বলেন, আমাদের তো সবই শেষ। নৌযান অলস পড়ে থেকে সেগুলোতে নানা ধরণের ক্রুটি দেখা দিয়েছে। বসিয়ে বসিয়ে বেতন দিতে হয়েছে কর্মচারীদের। ধার দেনা করে পুজি খাটিয়ে যে ব্যবসা শুরু করেছিলাম তা এখন যেন মরার উপর খড়ার ঘায়ে পরিণত হয়েছে। তারপরও যেহেতু অনুমতি দেয়া হচ্ছে আমরা সকল বিধি নিষেধ মেনেই ট্যুরিজম ব্যবসা পরিচালনা করবো।  

বশেমুরপ্রবিঃ ভর্তি বন্ধ হলেও অপূর্ণ হাজার আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি!

বশেমুরপ্রবিঃ ভর্তি বন্ধ হলেও অপূর্ণ হাজার আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি!



বশেমুরপ্রবি প্রতিনিধিঃবঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশাসন কর্তৃক প্রকাশিত সর্বশেষ অপেক্ষমান তালিকা থেকে শিক্ষার্থী সংগ্রহ বন্ধ এবং বিশ্ববিদ্যালয়টির সিট সংখ্যা অপূর্ণ রেখেই ক্লাস করেছেন শিক্ষার্থীরা।এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকের সামনে আমরণ অনশন করছে অপেক্ষামান থাকা শিক্ষার্থীরা।

এদিকে মহামারী করোনার ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে দীর্ঘদিন যাবৎ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। এর আগেই প্রশাসনিক ভাবে সকল একাডেমিক ভর্তি বন্ধ হয়েছে বলে মৌখিক বক্তব্য দিয়েছেন বিভিন্ন প্রশাসনিক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা।তবে অফিশিয়াল ভাবে ভর্তি বন্ধ সংক্রান্ত কোন তথ্য দেয়নি বশেমুরবিপ্রবি প্রশাসন।মৌখিক ভাবে একাডেমিক ভর্তি বন্ধের সময় বশেমুরবিপ্রবির ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা কমিটির আহবায়ক প্রফেসর ডঃ এম এ সাত্তার বলেন ভার্সিটি শুরু থেকে, নির্ধারিত সিট সংখ্যার অধিক শিক্ষার্থী ভর্তি হওয়ায়, ইচ্ছা করেই আর শিক্ষার্থী ভর্তি নেওয়া হবে না। সব ডিপার্টমেন্ট মিলে ১০০০ আসন সংখ্যা ফাঁকা রয়েছে। তিনি আরো বলেন সিট সংখ্যা ফাঁকা থাকলেও আমাদের ম্যানেজ করতে অনেক কষ্ট হয়।এবছর আর ভর্তি নেওয়া হবে না।

বশেমুরবিপ্রবির রেজিস্টার প্রফেসর ড. মোঃ নূরউদ্দিন আহমেদ এর সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করে না পাওয়া গেলে, একাডেমিক শাখা প্রধান সহকারী রেজিস্ট্রার মোঃ নজরুল ইসলাম হিরা জানান, ২৭৫০টি সিটে কোটা ছাড়া ২৩০৬ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে।একাডেমিক ভর্তি বন্ধ থাকায় ১ হাজার সিট ফাঁকা থাকার কথা। তবে সিট ফাঁকা রয়েছে প্রায় তিন শতাধিক। বাকি সিটে কে বা কারা ভর্তি হয়েছে এ বিষয়ে এখনও জানা যায়নি।এ বিষয়ে বশেমুরবিপ্রবির ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা কমিটির আহবায়ক জনাব মোহাম্মদ আশিকুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন এ বিষয়ে আমি কোন বক্তব্য বা কথা বলবো না।বশেমুরবিপ্রবির নবনিযুক্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কিউ এম মাহবুব বলেন- উক্ত বিষয়ে আমি অবগত নই।কতটি সিট ফাঁকা ছিল এবং কতজন ভর্তি হয়েছে এ বিষয়ে আমার জানা নেই।পূর্ববর্তী দায়িত্বে যারা ছিলেন ইতোমধ্যে তাদের কাছ থেকে বিষয়গুলো জানতে চেয়েছি। তবে কেউ যদি অনিয়ম বা দুর্নীতিতে জড়িত থাকে তার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে যাব।বশেমুরবিপ্রবির সাবেক ভারপ্রাপ্ত ভিসি অধ্যাপক ড. মো. শাহজাহানকে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি।কক্সবাজার থেকে আগত অপেক্ষমান শিক্ষার্থী মোঃ হুমায়ুনুল ইসলাম বলেন- আসনসংখ্যা ফাঁকা থাকা সত্ত্বেও বিনা নোটিশে ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়। প্রশাসনের নিকট আমাদের ভর্তি সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে চাইলে তারা বিভিন্নভাবে আমাদেরকে আশ্বাস দেয়। এরপর করোনা ভাইরাসের কারণে সারাদেশে লকডাউন দিলে কোন প্রকার অগ্রসর হওয়া সম্ভব হয়নি। দীর্ঘ দিন অপেক্ষা করেও কোন ফল না পাওয়ায় অনশনে যেতে বাধ্য হয়েছি। উল্লেখ্য যে, অনশনকারী শিক্ষার্থীরা এখনো কোনো স্মারকলিপি প্রশাসন বরাবর দেয়নি।

মানিকগঞ্জে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা) কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

 মানিকগঞ্জে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা) কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

আব্দুর রাজ্জাক, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধিঃবাংলাদেশ ইসলামি ছাত্র মজলিস মানিকগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যােগে গতকাল মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত মানববন্ধন ও  বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠানে  সভাপতিত্ব করেন মাওলানা ওমর ফারুক। পরিচালনা করেন জেলা সেক্রেটারী আশরাফুল ইসলাম উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য পেশ করেন বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল মুহাম্মদ মনির হোসাইন বাংলাদেশ  ইসলামি ছাত্র মজলিসের মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সাবেক সভাপতি মাওলানা মাহমুদুর রহমান মাওলানা খলিলুর রহমান মুফতি আবু বক্কর মাওলানা আনিসুর রহমান আনাস মাওলানা মাহবুবুর রহমান মাওলানা জাকিরুল ইসলাম আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা সেক্রেটারী আশিকুর রহমান ছানোয়ার  মাওলানা জুবায়ের আহমেদ এছাড়া ও আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্র মজলিসের এবং খেলাফত মজলিসের সাবেক এবং বর্তমান বিভিন্ন দায়িত্বশীলবৃন্দ ও সাধারণ মুসলিম জনতা

মাগুরার হাসপাতাল গেটে নতুন অভিযান,গ্রেপ্তার-২

 মাগুরার হাসপাতাল গেটে নতুন অভিযান,গ্রেপ্তার-২

 


মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কর্তৃক সম্প্রতি মাগুরা সদর হাসপাতাল গেটে  চলছে অবৈধভাবে মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় ও ব্যবহারের ওপর  জিরো টলারেন্স নীতি।  মাগুরার হাসপাতাল পাড়া ও কাউন্সিল পাড়ার অলি-গলি ছিল দীর্ঘ দিন ধরে  মাদকাসক্তদের অভয় অরণ্য।যেখানে নেশাখোরদের দিনদুপুরে ইনজেকশনের মাধ্যমে ওফেফিন,  প্যাথেড্রিন ও ইফিডিন‌ গ্রহণ করা ছিল নিত্যনৈমত্তিক ব্যাপার।চিহ্নিত নেশাখোরদের কাছে এই ইনজেকশনগুলো অবৈধভাবে বিক্রি করে আসছিল মাগুরা সদর হাসপাতালে পশ্চিম পাশে অবস্থিত কিছু চিহ্নিত ফার্মেসি। 

গতকাল ২৭ অক্টোবর আনুমানিক সন্ধ্যা সাতটায় মাগুরা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কর্তিক পুনরায় মাগুরা সদর হাসপাতালের পশ্চিম পাশে অভিযান চালায়। এই অভিযানে আমিরুল ফার্মেসির মালিক আমিরুলকে ও সাকুরা ফার্মেসির মালিক সাগরকে অবৈধ ভাবে মাদকসেবীদের কাছে ইফিডিন ইঞ্জেকশন বিক্রি ও সন্দেহজনক পরিমাণ মজুদ রাখার দায়ে গ্রেফতার করা হয়। উল্লেখ্য গত সপ্তাহে সাহা ফার্মেসিতে অভিযান চালানোর পর আজ সন্ধ্যায় দুইজন ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে এই অভিযান পরিচালনা করেন মাগুরা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। পরিদর্শক আব্দুর রহিম জানান "আমাদের কাছে খবর ছিল সাহা ফার্মেসিতে অভিযানের পর এই দুই ফার্মেসি গোপনে মাদকসেবীদের কাছে ইনজেকশন বিক্রি করছিল। এবং এদের কাছ থেকে সন্দেহজনক পরিমাণ ইফিডিন ইনজেকশন মজুত থাকায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৮ এর (ক) ও (গ) ধারায় আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।  তিনি আরো জানান আরো কিছু ফার্মেসি এই অবৈধ কর্মকান্ডের সাথে জড়িত, তাদের‌ সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।

মাদক ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরায় স্বামী-স্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরণ

মাদক ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরায় স্বামী-স্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরণ


মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার মাদক ব্যবসায়ী কয়েস আহমদ ও তাঁর স্ত্রী রায়না আক্তার এ দুই জন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে খুব পরিচিত ছিল। প্রশাসন থেকে শুরু করে এলাকার প্রতিটি শ্রেণীর মানুষই তাদের মাদক ব্যবসায়ী হিসাবে চিনতেন। ইয়াবা, গাঁজাসহ নানান মাদক বিক্রি করতেন তাঁরা। দীর্ঘদিন পর মাদক বিক্রির পাঠ চুকিয়ে এবার অন্ধকার পথ ছেড়ে আলোর পথে যাওয়ার জন্য পুলিশের হয়রানি থেকে বাচার জন্য কুলাউড়া উপজেলা যুবলীগের  সাংঠনিক সম্পাদক রুহুল আমীনের কাছে আসেন পরে তিনি ওসি সাহেবকে ফোন দিয়ে তাদেরকে থানায় নিয়ে যান। কুলাউড়া থানায় এসে আত্মসমর্পণ করেন উপজেলার কৌলা এলাকার এই দুই স্বামী-স্ত্রী।

স্বাভাবিক জীবন তথা আলোর পথে ফিরতে ২৭ অক্টোবর মঙ্গলবার রাতে কুলাউড়া থানায় এসে আত্মসমর্পণ করেন স্বামী-স্ত্রী। থানা পুলিশের পক্ষ থেকে তাদেরকে ফুল দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য শুভেচ্ছা জানানো হয়।

স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসা কয়েস ও তাঁর স্ত্রী রায়না প্রতিবেদককে জানান, ‘আমরা এখন পরিবার পরিজন নিয়ে সুস্থভাবে বাঁচতে চাই। অন্ধকার পথ খুবই খারাপ এখন আমরা বুঝতে পারছি। তাই আমরা প্রশাসনের কাছে অঙ্গীকার নামা দিয়ে এই পথ থেকে বিদায় নিয়েছি।’

এ বিষয়ে কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান এ প্রতিবেদককে বলেন, কেউ যদি মাদক ছেড়ে ভালো হতে চায় তাহলে তাদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য প্রশাসন সর্বাধিক সহযোগিতা করবে। স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসা এই দুই স্বামী-স্ত্রী কয়েস ও রায়নাকে পুলিশ সবসময় সহযোগিতা করবে বলে ওসি জানান।

ফ্রান্সে মহানবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে কুলাউড়ায় বিক্ষোভ

 ফ্রান্সে মহানবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে কুলাউড়ায় বিক্ষোভ




মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,  কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃফ্রান্সে মহানবী (সা.) কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ ও অবমাননা করার প্রতিবাদে কুলাউড়ায় বিক্ষোভ এবং প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৭ অক্টোবর মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার সময়ে  বাংলাদেশ আনজুমানে তালামিযে ইসলামিয়া কুলাউড়া উপজেলা এবং পৌর শাখার আয়োজনে এ বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।স্টেশন রোড থেকে শুরু হয়ে বিক্ষোভ মিছিলটি উত্তর রেল আউটার ও দক্ষিণ বাজার পর্যন্ত পৌর শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে স্টেশন রোডস্থ চৌমুহনীতে প্রতিবাদ সভায় বাংলাদেশ আনজুমানে তালামিযে ইসলামিয়া উপজেলা শাখার সভাপতি আফজাল হোসেন সাজুর সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা ফজলুল হক খান সাহেদ, বাংলাদেশ আনজুমানে তালামিযে ইসলামিয়া কেন্দ্রীয় পরিষদের অর্থ সম্পাদক খন্দকার অজিউর রহমান।

এ সময় বক্তারা মহানবী (সা.) কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের জন্য ফ্রান্স সরকারকে মুসলিম উম্মাহর কাছে নি:শর্ত ক্ষমা চাওয়ার দাবি করা হয়। নতুবা ফ্রান্সের সকল পণ্য ও তাদের সকল কর্মকান্ডকে বয়কট করার হুশিয়ারি প্রদান করা হয়।

বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আল ইসলাহ নেতা মাওলানা আব্দুল ওয়াহিদ, আতিকুর রহমান আখই, মাওলানা কাজী এহসান মাহবুব জাকির, কাজী ফখরুল ইসলাম, হাফিজ এবাদুর রহমানসহ উপজেলা আল ইসলাহ, উপজেলা ও পৌর তালামিযের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা।

পাহাড়পুরে ৭বছরের শিশুকে ধর্ষণ

পাহাড়পুরে ৭বছরের শিশুকে ধর্ষণ

রহমতউল্লাহ আশিকুর জামান  নুর বদলগাছী নওগাঁঃপাহাড়পুরে ৭বছরের শিশুকে ধর্ষণ। ঘটনা সুত্রে জানা যায় টিভি দেখার প্রলোভন দেখিয়ে শিশুটিকে বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে শয়ন ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। শিশুটির চিৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে এসে রক্তাক্ত অবস্তায় তাকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।এ সময় নাইম হোসেন ও তার বন্ধু রিফাদ কৌশলে পালিয়ে যায়।এ ঘটনায় সহকারী পুলিশ সুপার মহাদেবপুর-বদলগাছী(সার্কেল) আবু ছালেহ মো. আশারাফুল আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি সরেজমিনে তদন্ত করেছি। শিশুটির অসুস্থতার কারণে মামলা করতে দেরী হচ্ছে। তবে মামলার প্রস্ততি চলছে।বদলগাছী থানার ওসি চৌধুরী জোবায়ের আহমেদ বলেন, বাদী পক্ষের অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সিরাজগঞ্জে মা ইলিশ রক্ষায় অভিযান, ১৩ জেলের সাজা

 সিরাজগঞ্জে মা ইলিশ  রক্ষায় অভিযান, ১৩ জেলের সাজা

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃজেলারর  সদর উপজেলায় মা ইলিশ রক্ষায় অভিযান চালিয়ে ১৩ জেলের সাজা দেওয়া হয়েছে। সোমবার  (২৬ অক্টোবর) রাত ৮টা থেকে মঙ্লবার (২৭ অক্টোবর) ভোর ৬ ঘটিকা  পর্যন্ত মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১৩ জন জেলে সহ  প্রায়  এক লাখ মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল আটক করা হয়। ১৩ জন জেলের প্রত্যেককে ১০ দিন করে জেল প্রদান করেন সিরাজগঞ্জ সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি)  ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ।এ সময় কারেন্ জাল আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। মোবাইল কোর্টে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন জনাব মোঃ আনোয়ার হোসেন, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার, সিরাজগঞ্জ সদর।  ভূমি অফিস, মৎস্য দপ্তর এর স্টাফবৃন্দ ও সিরাজগঞ্জ আনসার বাহিনীর সদস্যগণ উক্ত মোবাইল কোর্টে উপস্থিত ছিলেন।