মাছের ঘেরে আটন ঝাড়তে গিয়ে ঘের মালিকের অকাল মৃত্যু

মাছের ঘেরে আটন ঝাড়তে গিয়ে ঘের মালিকের অকাল মৃত্যু



আহসান উল্লাহ  বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধি: আশাশুনির তুষখালীতে মৎস্য ঘেরে ঘুনি (আটন) ঝাড়তে গিয়ে এক ঘের মালিকের অকাল মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের তুষখালী গ্রামের মৃত. নলিনী রঞ্জন সরকারের পুত্র ইলেক্ট্রিক মেকানিক শ্যামল কুমার সরকার (৪৮) ঘুম থেকে উঠে পাশে তার মৎস্য ঘেরে ঘুনি ঝাড়তে যান। ধারনা করা হচ্ছে, একটি ঘেরের ঘুনি (আটন) দেখে দ্বিতীয় ঘেরে ঢুকার মুখে তিনি হঠাৎ স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে পানিতে পড়ে গিয়ে মৃত্যুবরণ করেন। পাশের ঘেরের লোকজন মাছ ধরে ফেরার পথে তার মৃতদেহ ভেসে থাকতে দেখে খবর দিলে বিষয়টি জানাজানি হয়। ওইদিন দুপুর ১টার দিকে বাউশুলী শ্মশানে তার অন্তেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়। মৃতকালে তিনি স্ত্রী, ২ কন্যা ও ১ পুত্র সন্তান রেখে গেছেন। 

খুলনায় মাস্ক পরিধান না করায় ভ্র্যাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ২৬৯০০ টাকা জরিমানা

খুলনায় মাস্ক পরিধান না করায় ভ্র্যাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ২৬৯০০ টাকা জরিমানা


তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা নগর প্রতিনিধিঃ
করোনাভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাব্য দ্বিতীয় ওয়েভ মোকাবেলার প্রস্তুতি হিসেবে আজ ০১ ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখে সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেন পিএএ মহোদয়ের নির্দেশে নগরীর জলিল টাওয়ার, ডাক বাংলা, করিম নগর, সোনাডাঙ্গা এবং বয়রা বাজার এলাকায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালিত হয়। মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোঃ ইসমাইল হোসেন, জনাব মোঃ রাকিবুল হাসান, জনাব দেবাশীষ বসাক এবং জনাব তাহমিনা সুলতানা নীলা।  এছাড়া উপজেলাসমূহে উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি)-গণ নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। 

সূত্রমতে, মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে মাস্ক সাথে না থাকায় এবং যথাযথভাবে মাস্ক পরিধান না করায় ৪০টি মামলায় ৪১ (একচল্লিশ) জনকে মোট ২৬,৯০০/- (ছাব্বিশ হাজার নয়শত) টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। 'সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮' এবং 'দণ্ডবিধি, ১৮৬০' এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক এসব জরিমানা করা হয়। এছাড়াও 'সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮' এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। 

এদিকে নগরীতে তামাক বিরোধী অভিযানে তামাকের বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের দায়ে 'ধুমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০০৫' এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক ৪ টি মামলায় ২,০০০/- (দুই হাজার) টাকা জরিমানা করা হয়।

সম্প্রতি করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় গত ০৮ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখের জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভার সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে ০৯ নভেম্বর, ২০২০ তারিখ থেকে জেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থা গ্রহণ করে। 

মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন ব্যাটালিয়ন আনসারের সদস্যগণ এবং উপজেলাসমূহে স্ব-স্ব থানা পুলিশের সদস্যগণ। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে, সড়কে যান চলাচলে শৃঙ্খলা আনয়নে এবং প্রকাশ্যে ধুমপান ও তামাকজাত পণ্যের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে জেলা প্রশাসনের এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট বিগ এক্টিভেশন প্রোগ্রাম

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট বিগ এক্টিভেশন প্রোগ্রাম


তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা নগর প্রতিনিধিঃ
আজ জেলা প্রশাসক, খুলনা'র সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয় বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) এক্টিভেশন প্রোগ্রাম।

খুলনা জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেন পিএএ মহোদয়ের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র জনাব তালুকদার আব্দুল খালেক মহোদয়। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার, খুলনা জনাব সৈয়দ রবিউল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি), খুলনা জনাব মোঃ সাদিকুর রহমান খান, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব এমডিএ বাবুল রানা, খুলনা প্রেস ক্লাবের সভাপতি জনাব এস এম নজরুল ইসলাম, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি জনাব মুন্সী মাহবুবুল আলম সোহাগসহ প্রন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ এবং খুলনা জেলা প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট দপ্তরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান- এর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে প্রকল্পের পক্ষ হতে "বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ)" প্রতিযোগিতা আয়োজনের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এ আয়োজনে ১০০ টি স্টার্টআপ কে বিগ এর আওতায় গ্রান্ট প্রদান করা হবে।  

সরকারের "রূপকল্প-২০২১" বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে বংলাদেশে উদ্ভাবন ইকোসিস্টেম এবং উদ্যোক্তা সংস্কৃতি  গড়ে তোলার লক্ষ্যে "তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আওতায় "বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল" এর তত্ত্বাবধানে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক মাননীয় উপদেষ্টা জনাব সজীব ওয়াজেদ মহোদয়ের চিন্তাপ্রসূত "উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমী প্রতিষ্ঠাকরণ (iDEA: Innovation Design and Entrepreneurship Academy)" শীর্ষক প্রকল্পের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর "সোনার বাংলা" বিনির্মাণের স্বপ্ন বাস্তবায়নে ‍ iDEA প্রকল্প থেকে ইতোমধ্যে শতাধিক স্টার্টআপকে গ্র্যান্ট প্রদান-সহ প্রশিক্ষণ, মেন্টরিং ও বিভিন্নভাবে সহোযোগিতা প্রদান করা হয়েছে।

খুলনায় মাদক বিরোধী টাস্কফোর্সের অভিযান ১১২ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার আটক ৫

খুলনায় মাদক বিরোধী টাস্কফোর্সের অভিযান ১১২ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার আটক ৫

তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা নগর প্রতিনিধিঃ
খুলনা জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের নির্দেশে এবং অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোঃ ইউসুপ আলী মহোদয়ের তত্ত্বাবধানে আজ খুলনা মহানগরীর হরিণটানা এলাকায় জেলা প্রশাসন খুলনার নেতৃত্বে মাদকবিরোধী টাস্কফোর্সের অভিযান পরিচালিত হয়।

খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান,
খুলনা জেলা প্রশাসন ও খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রচেষ্টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ১১২ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসন, খুলনার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোঃ ইসমাইল হোসেন এবং জনাব মোঃ রাকিবুল হাসান। 

জিরো পয়েন্ট কৃষ্ণনগর এলাকায় ১১২ বোতল ফেন্সিডিল বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে মজুদ করা হয়েছিলো। ফেন্সিডিল ব্যবসার সাথে জড়িত পাঁচ জনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেনঃ ১. শেখ ইমরান হোসেন ইমু(২২), ২. মাহমুদ হোসেন ইমরান (২৫), ৩. আব্দুল হান্নান (২৩), ৪. মোঃ আলাল শেখ (৩০), ৫. মোঃ ইউসুফ উদ্দিন গাজী (৩০)। খুলনা জেলায় মাদকের ব্যবহার ও বাণিজ্য রোধে জেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে টাস্কফোর্সের এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আশাশুনিতে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে মানববন্ধন

 আশাশুনিতে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে মানববন্ধন

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধিঃ আশাশুনিতে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ’২০ উপলক্ষে মানববন্ধন ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলা প্রধান সড়কে উদ্দীপ্ত মহিলা উন্নয়ন সংস্থা ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। উদ্দীপ্ত মহিলা উন্নয়ন সংস্থার উপদেষ্টা দিলীপ কুমার দাশের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ছাইদুল ইসলাম ও উদ্দীপ্ত মহিলা উন্নয়ন সংস্থার কো-অর্ডিনেটর চায়না রানী দাশ। ‘শেখ হাসিনার বারতা, নারী-পুরুষ সমতা’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে ‘কমলা রঙের বিশ্বে নারী বাঁধার পথ দিবেই পাড়ি’ এই বারতা নিয়ে বক্তারা নারী নির্যাতন প্রতিরোধে সকল পরিবার থেকেই প্রথম পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান। এছাড়া করোনাকালীন সময়ে নারী ও কন্যা শিশুর সুরক্ষার দাবী জানান। 

গাবতলীতে ২কোটি ২২লাখ টাকা ব্যয়ে আরসিসি বক্স কালভার্টের 

গাবতলীতে ২কোটি ২২লাখ টাকা ব্যয়ে আরসিসি বক্স কালভার্টের 

 


মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ   নট-পোড়াদহ-পীরগাছা-মোকামতলা (চৌকিরঘাট) জেলা মহাসড়ক (জেড-৫০৭২) এর ৩৭তম কিলোমিটার আরসিসি বক্স কালভার্ট বগুড়া গাবতলীর নাড়ু–য়ামালাতে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে।

প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্বোধন করেন বগুড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গাবতলী উপজেলা চেয়ারম্যান রফি নেওয়াজ খান রবিন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সড়ক ও জনপদ বিভাগ, বগুড়ার উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী রাফিউল ইসলাম, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি (ভারঃ) আব্দুস সালাম ভূলন, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল গফুর, সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান জুয়েল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম মুক্তা।

রেকসেনা আকতার, বগুড়া-৭আসনের এমপির গাবতলী প্রতিনিধি জাফরু পাইকার, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মোজাহার এন্টার প্রাইজ এর প্রতিনিধি ইঞ্জিনিয়ার রায়হান, কামাল, নাড়–য়ামালা ইউপি চেয়ারম্যান গোফ্ফার আলী, নাড়–য়ামালা ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি বাদশা, সাধারণ সম্পাদক তারাজুল, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মানিক, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু জাহিদ পায়েল, পৌর যুবলীগের সভাপতি হিরন পাইকার, সাংগঠনিক সম্পাদক পিপুল।

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি শাহাদত, জেলা ছাত্রলীগের সদস্য রয়েল, ছাত্রলীগ নেতা ছঈম সরকার প্রমুখ। ২কোটি ২২লাখ টাকা ব্যয়ে কাজটি বাস্তবায়ন করেছে সড়ক ও জনপদ বিভাগ।

নড়াইল থেকে( ২)ওয়ারেন্টের আসামী আটক

 নড়াইল থেকে( ২)ওয়ারেন্টের আসামী আটক

মো: আজিজুর বিশ্বাস ষ্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃনড়াইলের পুলিশ সুপারের  নির্দেশে, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে, ০১/১২/২০২০ তারিখ সন্ধ্যা ০৬,৩০ ঘটিকায় সময় নড়াইল সদর থানাধীন গোবরা বাজার হইতে, জি আর ৫৮/২০ এর ওয়ারেন্টের আসামী ১/মোঃ সজীব হোসেন, পিতাঃ আলতাব হোসেন,সাং গোবরা,২/ মনির, পিতাঃ মিজানুর রহমান,সাং পাইকপারা, উভয় থানা+ জেলা নড়াইল কে জেলা ডিবি পুলিশের এএসআই আনিস,ও সঙ্গীয় ফোর্স কং বিকাশ,দেলোয়ার,জুনায়েদ,সরোয়ার সহ  আসামিদের গ্রেফতার করেন।ডিবি পুলিশের এএসআই আনিচ বলেন আসামীদের গ্রেফতার করে নড়াইল সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। 

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনের বিরুদ্ধে মন্তব্যকারীদের বিচার এর দাবিতে মানববন

বঙ্গবন্ধুর  ভাস্কর্য স্থাপনের বিরুদ্ধে মন্তব্যকারীদের বিচার এর  দাবিতে মানববন


রহমতুল্লা আশিকুর জ্জামাননুর,বদল গাছি,  নওগাঁঃ বদলগাছীতে জঙ্গিবাদ মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সমাবেশ মিছিল  ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনের বিরুদ্ধে মন্তব্যকারীদের বিচার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বদলগাছী উপজেলা চৌরাস্তার মোড় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।নওগাঁ জেলা বদলগাছী উপজেলায় চৌরাস্তা মোড়ে  বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন এর বিরুদ্ধে মন্তব্যকারীদের বিচার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ১ ই ডিসেম্বর মঙ্গলবার বেলা ১০ টায় জঙ্গিবাদ মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে (মোহাম্মদ ইমামুল  আল -হাসান তিতু,)  সভাপতি  আওয়ামী যুবলীগ  এর নেতৃত্বে  বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

এবং একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির বদলগাছী উপজেলা নওগাঁ  এর আয়জনে  মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে ধৃষ্টতাপূর্ণ উক্তিকারীদের  বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় উক্ত মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন (মোঃ ফাহিম) একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি সহ-সভাপতি  করেন তুষার সিংহ (পাপ্পু) একাত্তরের  ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি   এবং উক্ত মানববন্ধনে বক্তৃতা পেশ করেন- মোহাম্মদ ইমামুল আল হাসান (তিতু) সভাপতি বদলগাছী আওয়ামী যুবলীগ, সুমাইয়া সিদ্দিকা (ফেন্সি),  নওগাঁ জেলা মহিলা লীগ,মমতাজ চৌধুরী,বদল গাছী উপজেলা মহিলা লীগ।ইসরাফিল খান (বাপ্পি), সাধারণ সম্পাদক জেলা শাখা আরও বক্তব্য প্রদান করেন নজরুল, মাহবুব-উল-আলম, জামিল  সহ আর নেতা কর্মী।

উক্ত মানববন্ধনে বক্তারা তাদের বক্তৃিতায় বলেন  মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বিরুদ্ধে ধৃষ্টতাপূর্ণ উক্তিকারীদের  বিচার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হক।

আশাশুনিতে ভূমিহীন গৃহহীনদের গৃহ নির্মাণ কাজ পরিদর্শন

আশাশুনিতে ভূমিহীন গৃহহীনদের গৃহ নির্মাণ কাজ পরিদর্শন

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধি: কেউ আর এই কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আশাশুনিতে ভূমিহীন গৃহহীনদের গৃহ নির্মাণ কাজ পরিদর্শন। মঙ্গলবার বিকালে আশাশুনি সদর ও বুধহাটা ইউনিয়নে ক শ্রেণির ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য নির্মানাধিন ঘরের কাজ পরিদর্শন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ মাহমুদুর রহমান | এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মোস্তাকিম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা,সহকারি কমিশনার (ভূমি) শাহিন সুলতানা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সোহাগ খান, সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন প্রমুখ।

লোহাগড়া ডিবির অভিযানে ৪৮পিচ ইয়াবা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক

লোহাগড়া ডিবির অভিযানে ৪৮পিচ ইয়াবা সহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক


মোঃ আজিজুর বিশ্বাস,ষ্টাফ রির্পোটার,নড়াইলঃনড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার নারায়দিয়া গ্রাম থেকে ৪৮ পিচ ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যাবসায়ী  ডিবি পুলিশের হাতে আটক।পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নড়াইলের ডিবি পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসঅাই মনির, হোসেনের নেতৃত্বে সংগীয় ফোর্স নিয়ে নারায়দিয়া গ্রামের হিরু মিয়ার বাড়ির পাশ থেকে তালবাড়িয়া গ্রামের মো: রন্জু মোল্যার ছেলে মো: মামুন মোল্ল্যা (২৬) কে ১/১২/২০২০ তারিখ : মঙ্গলবার দুপুর দুই টা ৩০ মিনিটের সময় অভিযান চালিয়ে তাকে ৪৮পিচ ইয়াবাসহ হাতেনাতে অাটক করা হয়।নড়াইলের ডিবি পুলিশের এসঅাই মনির হোসেন বলেন অাসামি মামুন কে লোহাগড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ অাশিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা শিকার করে বলেন, অাসামির নামে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অাইনে মামলা দায়ের করা হচ্ছে।

পুণ্যস্নানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ৩ দিন ব্যাপী রাস উৎসব

পুণ্যস্নানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ৩ দিন ব্যাপী রাস উৎসব


রিয়াছাদ আলী দুবলার চর থেকে ফিরেঃ সুন্দরবনের  দুবলার চরে জাগ‌তিক জগতের পাপ মোচনের আশায় পুণ্যস্নানের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের রাস উৎসব। এ বছর রাস উৎসবে প্রায় ১৫ হাজার পূণ্যার্থীর আগমন ঘটে। গত সোমবার সুন্দরবনের দুবলার চরে ভোর ৬ টায় সূর্য ওঠার আগেই পুণ্যার্থীরা সাগরের লোনা জলে জাগ‌তিক জগতের পাপ মোচনের আশায় স্নান করেন। পুণ্যস্নান শেষ হয় সকাল ৭ টায়। স্নানের পূর্বে পূণ্যার্থীরা সাগর পাড়ে মনের আশার পূরণ ও পুণ্য লাভের আশায় প্রার্থনা করেন। এর আগে রোববার পূজার সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা । সোমবার ভোরে স্নান শেষে পুণ্যার্থীরা সকালেই সকলের গন্তব্যে ফিরতে শুরু করেন। তবে এ বছর সুন্দরবন খুলনা রেঞ্জের কঠোর নিরাপত্তা সকলের চোখে পড়ার মতো। কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শেষ হয়েছে রাস উৎসব। নলিয়ান স্টেশন কর্মকর্তা শেখ মোঃ আনিছুর রহমান বলেন, এ বছর খুলনা রেঞ্জে ৯৮ টি ইঞ্জিন চালিত ট্রলারে ২৩ শ ৮৮ জন পুনর্থীরা পাশ (অনুমতি) গ্রহন করেন। এতে ৩ লক্ষ ৭৪ হাজার ৬ শ ৭৩ টাকা রাজস্ব আদায় করা হয়। তিনি আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার সুন্দরবনের দুবলার চরে রাস উৎসব বা মেলা হয়নি। তবে আনুষ্ঠা‌নিকতার কম‌তি ছিলনা সনাতন ধর্মাবলম্বীদের। এ বছর শুধুমাত্র সনাতন (হিন্দু) ধর্মাবলম্বী ছাড়া অন্য কোনো ধর্মের মানুষ অর্থাৎ পর্যটক ও দর্শনার্থীদের দুবলার চরে যাবার অনুম‌তি পায়নি। তবে বন বিভাগের নির্ধারিত বিভিন্ন শর্ত মেনে শুধুমাত্র সনাতন ধর্মালম্বীরা রাস পূর্ণিমার পূজা ও পুণ্যস্নানে অংশ গ্রহণ করতে পেরেছেন। করোনা প‌রি‌স্থি‌তির কারণে পূণ্যর্থীদের সব সময় মুখে মাস্ক ও স্যা‌নিটাইজার ব্যবহার করেছেন। আলোরকোল বন টহল ফাঁড়ির স্টাফ জাহাঙ্গির হোসেন বলেন, ২৯ নভেম্বর সন্ধ্যায় সুন্দরবনের দুবলার চরে রাস পূজা ও ৩০ নভেম্বর সকালে দুবলার চর সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে পুণ্যস্নানের মাধ্যমে এবারের রাস উৎসব শেষ হলো। স্বাভা‌বিক সময়ে রাস মেলায় লক্ষাধিক মানুষের আগমন হলেও এবার মেলা বন্ধ থাকায় প্রায় ১৫ হাজার লোক সমাগম হয়েছে রাস উৎসবে। এর আগেও ২০১৯ সালে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে রাস পূজা ও পুণ্যস্নান উপলক্ষে কোনো মেলা বা উৎসব হয়নি। তিনি আরও বলেন প্রতিবছর কার্তিক মাসের শেষ বা অগ্রহায়ণের প্রথম দিকে শুক্লাপক্ষের ভরা পূর্ণিমায় সুন্দরবনের দুবলার চরের আলোরকোলে তিনদিন ব্যাপী রাস মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এটি এশিয়ার সব থেকে বড় সমুদ্র মেলা। খুলনা রেঞ্জের সহকারি বন সংরক্ষক (এসিএফ) মোঃ সালেহ বলেন, রাস উৎসবকে কেন্দ্র করে সুন্দরবনের খুলনা রেঞ্জের অধিনস্থ এলাকায় ১৭ টি টহল টিম সপ্তাহ ব্যাপী টহল কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শেষ হয়েছে রাস উৎসব। সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের (ডিএফও) ড.আবু নাসের মোহসিন হোসেন বলেন, রাস উৎসবকে কেন্দ্র করে মেলার তিন দিন আগে নিজেই সুন্দরবনে অবস্থান করে টহল কার্যক্রম চালিয়েছি। পুর্ণাথীরা যাতে চলাফেরা করতে পারে তার জন্য বন বিভাগের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক নিরাপত্তার গ্রহন করা হয় বলে তিনি জানান।

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করলেন মাদকমুক্ত নবীনগর চাই

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করলেন মাদকমুক্ত নবীনগর চাই

এস.এম অলিউল্লাহ  (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধিঃব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে প্রতিবাদের সুরে, মাদক থাকবে দূরে এই স্লোগানে প্রতিষ্ঠিত মাদক মুক্ত নবীনগর চাই সংগঠনের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১/১২) দুপুরে নবীনগর প্রেস ক্লাব অফিসে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত মতবিনিময় সভায় প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুব আলম লিটনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কল্লোলের সঞ্চালনায় মাদকমুক্ত নবীনগর চাই সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ আবু কাওসার সংগঠনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য উপস্থিত সকল সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে উপস্থাপন করেন এবং পরবর্তীতে সংগঠনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের বিভিন্ন দিক নিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি। প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি ও বর্তমান উপদেষ্টা আবু কামাল খন্দকার সংগঠনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়ে বিভিন্ন দিক নির্দেশনামূলক, ইতিবাচক, নেতিবাচক সকল কিছুই উপস্থিত সকলের নিকট তুলে ধরেন এবং উপদেশ মূলক বক্তব্য রাখেন। 

এসময় মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সহ-সভাপতি ইমতিয়াজ বেগ ইমন, জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী ও মোঃ হেলাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, পৌর শাখার সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মাজেদুল ইসলাম, উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াহিদুজ্জামান দিপু ও মোহাম্মদ ওয়াসিম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক কাউছার আলম, পৌর শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আল মামুন পাশা, সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম, মোহাম্মদ আল মামুন সহ আরো অনেকে।

দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি :সর্র্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নিয়ে কটুক্তিপুর্ণ বক্তব্য রাখায় মাওলানা মামুনুল হককে দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় আনার দাবিতে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করেছে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ দিনাজপুর জেলা শাখার নেতাকর্মীরা।
দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সম্মুখ সড়কে বঙ্গবন্ধুর সৈনিক লীগ জেলা শাখার আয়োজনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, দিনাজপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল। তিনি বলেন, ভাস্কর্য আর মুর্তি এক নয়। এটি সাম্প্রদায়িক ধর্মান্ধতা গোষ্ঠী এটিকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে দেশের সাম্প্রদায়িক বিনষ্টের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। তিনি আরো বলেন, প্রয়োজনে এই   মৌলবাদী গোষ্ঠী ও পাকিস্তানি দালালদের যে কোন মূল্যে প্রতিহত করা হবে।
আয়োজিত অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের আহবায়ক মো: কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন, যুগ্ন-আহবায়ক মামুনুর রশীদ সদস্য সচিব মো: মেহেদি হাসান, মো: মশিউর রহমান চয়ন,জাকির হোসেন ও রতন শর্মা প্রমুখ। বক্তারা মাওলানা মামুনুল হককে অতিদ্রত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানান।


পটিয়া পৌর ৪ নং ওয়ার্ডে মিজান ষ্টোরে দুর্ধর্ষ চুরি!

 পটিয়া পৌর ৪ নং ওয়ার্ডে মিজান ষ্টোরে দুর্ধর্ষ চুরি!

পটিয়া  (চট্টগ্রাম)  প্রতিনিধিঃ- চট্টগ্রামে পটিয়া পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডে এস আলম বাড়ি সংলগ্ন  সড়কে মুদির দোকান মিজান ষ্টোর দুর্ধর্ষ চুরি সংগঠিত হয়েছে। চুরির ঘটনায় জাপর কাজীর বাড়ির ইসলাম নবী ছেলে কাজী কাজী মোঃ মিজান বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা চুরি দলের বিরুদ্ধে পটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগ সুএে জানাযায়, ৩০ নভেম্বর রাত সাড়ে ১০ টার দিকে কাজী মোঃ মিজান প্রতিদিনের ন্যায় দোকান বন্ধ করে পাশে তার ঘ ঘরে ঘুমাতে যায়। পরের দিন  ১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার  সকাল সাড়ে ৮ টার সময় দোকান খুলতে এসে মিজান  দেখে তার দোকানের চাটারের  দরজায় লোহার গ্রিলে লাগানো ৬ টি তালা কাটার দিয়ে কেটে দোকানের ভিতরে সংগোপনে প্রবেশ করে ছুরের দল নগদ ৪৭ হাজার তিনশত টাকা এবং দোকানের তৈল,ছিনি, চা-পাতা দুধ, আডং ঘি, আইসক্রিম বিভিন্ন ব্র্যান্ডের দামি সিগারেট সহ সর্বমোট আনুমানিক ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা মালমাল ছুরি করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ সুএে প্রকাশ। এব্যাপারে পটিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ  ওসি রেজাউল করিম জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে  ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

সিরাজগঞ্জে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে অর্থদন্ড

সিরাজগঞ্জে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে  অর্থদন্ড

মাসুদ রানা, সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ যানা যায় গোপন সূত্রের ভিত্তিতে অবৈধ উপায়ে বিপণনের উদ্দেশ্যে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে সংবাদ পেয়ে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার বহুলী ইউনিয়নের সরাইচন্ডী নামক স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন সিরাজগঞ্জ সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি)  ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ।

মঙ্গলবার দুপুর ৩টার দিকে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। মাহমুদুল হাসান নামক জনৈক ব্যক্তি এলাকায় অবৈধ উপায়ে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়। পরবর্তীতে বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৪ ধারার অপরাধে ১৫ ধারায় অভিযুক্ত কে (নব্বই হাজার)টাকা অর্থদন্ড করেন।

 অবৈধ উপায়ে বালু উত্তোলন বিরোধী অভিযান চলবে বলে তিনি জানান।এ সময় সিরাজগঞ্জ আনসার বাহিনীর সদস্যগণ উক্ত মোবাইল কোর্টে উপস্থিত ছিলেন।

নওগাঁর আত্রাইয়ে ২দিন ব্যাপি কর্মশালার সমাপনী

নওগাঁর আত্রাইয়ে ২দিন ব্যাপি কর্মশালার সমাপনী

রাজশাহী ব্যুরোঃ নওগাঁর আত্রাইয়ে উপজেলা পরিষদের আয়োজনে এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসের বাস্তবায়নে দুই দিন ব্যাপী কর্মশালার সমাপ্তি হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে হরিজন সম্প্রদায়ের প্রতি সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের নিমিত্তে সচেতনতামূলক কর্মসালার সমাপ্তি করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ছানাউল ইসলাম। এসময় উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান শেখ হাফিজুল ইসলাম ও মমতাজ বেগম, ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হক নাদিম, সমাজসেবা অফিসার সাইফুল ইসলাম, যুব উন্নয়ন অফিসার ফজলুল হক, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুস ছালাম, মহিলা বিষয়ক অফিসার মোয়াজ্জেম হোসেন,একাডেমিক সুপারভাইজার প্রদীপ কুমার সরকার,আইসিটি অফিসার সানজিদ শিশির,আত্রাই প্রেস ক্লাব সভাপতি রুহুল আমীন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
কর্মশালায় হরিজন সম্প্রদায়গন সমাজে সর্ব ক্ষেত্রে অবাধ বিচরণ এবং তাদের শ্রেণী পেশায় চাকুরীর অগ্রাধিকার দেওয়ার দাবি জানালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ছানাউল ইসলাম উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবগত করবেন বলে জানান।
মোঃ ফিরোজ হোসাইন
রাজশাহী ব্যুরো 
০১৭১০৯৬৭৫২২
১/১২/২০২০

মোংলা বন্দরের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

মোংলা বন্দরের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ মোংলা বন্দরের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। তবে এবার করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বল্প পরিসরে উদযাপন করা হয়েছে বন্দরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। মঙ্গলবার সকালে বন্দরের প্রশাসনিক ভবন চত্বরে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী কর্মসূচীর শুভ সূচনা করেন বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজাহান। এ সময় তিনি বন্দরের কর্মকতার্-কর্মচারী ও সকল ব্যবসায়ীদেরকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানিয়ে সংক্ষিক্ত বক্তব্য রাখেন। এরপর বন্দরের কর্মকতার্-কর্মচারীদের অংশগ্রহণে বের হওয়া বণার্ঢ্য রালী বন্দর এলাকা প্রদক্ষিণ করে। পরে বন্দরের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এক সংবাদ সম্মেলন। সংবাদ সম্মেলনে মোংলা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ ও সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজাহান বন্দরের বর্তমান চলমান ও ভবিষ্যৎ কর্ম পরিকল্পনা সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরেন। এ সময় তিনি বলেন, পদ্মা সেতু, রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, মোংলা-খুলনা রেল লাইন ও খান জাহান আলী বিমান বন্দরের কার্যক্রম দৃশ্যমান হওয়ার পাশাপাশি বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে ব্যাপক কার্যক্রম চলমান রয়েছে এবং নতুন প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ১০টি প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন রয়েছে। তিনটি প্রকল্প (ভবিষ্যৎ প্রকল্প) অনুমোদন প্রক্রিয়াধীন আর বিবেচনাধীন (ভবিষ্যৎ প্রকল্প) রয়েছে ১৩টি প্রকল্প। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ভিষণ ২০২১ বাস্তবায়নে মোংলা বন্দর এগিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। এর প্রমাণ হলো গত নভেম্বর মাসে মোংলা বন্দরে ১০৬টি জাহাজের আগমন ঘটেছে। যা ৭০ বছরের ইতিহাসে রের্কড সৃষ্টি করেছে। এর আগে অক্টোবরে ৭০টি এবং সেপ্টেম্বরে ৮৩টি জাহাজ এ বন্দরে ভিড়ে। বিগত বছরগুলোতে যেখানে মোট ৭০/৮০টি জাহাজ আসতো, এখন তা বৃদ্ধি পেয়ে প্রতিমাসেই তার চেয়েও বেশি জাহাজ আসছে। এটা সম্ভব হয়েছে বন্দরের ক্রমাগত উন্নয়নের জন্যই। বন্দরের সার্বক্ষনিক সেবাদান ও বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধার কারণে ব্যবসায়ীরা এ বন্দর ব্যবহারে আগ্রহী হচ্ছেন। আগামীতে এ বন্দরে ৩ হাজার জাহাজ, ৩০ হাজার গাড়ী, ৮ লাখ টিইউজ কন্টেইনার ও ৪ কোটি মেট্টিক টন কাগোর্ হ্যান্ডেলিং করার সক্ষমতা ও দক্ষতা বৃদ্ধিসহ বন্দরের সার্বিক অবকাঠামো নিমার্ণ ও আধুনিকায়নের জন্য প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (প্রকৌশল ও উন্নয়ন) ইয়াসমিন আফসানা, সদস্য (হারবার ও মেরিন) ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ আলী চৌধুরী, পরিচালক (প্রশাসন) গিয়াস উদ্দিন, হারবার মাষ্টার কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন, প্রধান অর্থ ও হিসাবরক্ষণ কর্মকতার্ মো: সিদ্দীকুর রহমান,  পরিচালক (ট্রাফিক) মো: মোস্তফা কামাল, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্মচারী সংঘের সভাপতি সাইজউদ্দিন মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মো: ফিরোজসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। 

আরও পড়ুনঃ   নওগাঁর আত্রাইয়ে ২দিন ব্যাপি কর্মশালার সমাপনী

উল্লেখ্য, ১৯৫০ সালের ১লা ডিসেম্বর চালনা বন্দর দেশের দ্বিতীয় সমুদ্র বন্দর হিসেবে যাত্রা শুরু করে। এরপর ১৯৫৪ সালের ২০ জুন চালনা থেকে সরিয়ে মোংলায় স্থানান্তার করা হয়। ভৌগলিক দিকে দিয়ে তৎকালীন চালনা বন্দর ছিল খুলনা জেলায় আর বর্তমান মোংলা বন্দর বাগেরহাট জেলায় অবস্থিত।

কুড়িগ্রামের কৃতী সন্তান বীর প্রতীক তারামন বিবির দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী আজ

কুড়িগ্রামের কৃতী সন্তান বীর প্রতীক তারামন বিবির দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী আজ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের জন্ম ইতিহাসের সঙ্গে জড়িত একটি নাম তারামন বিবি। একটি বীরত্বপূর্ণ নাম। একই সঙ্গে একটি ইতিহাস। ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধে সক্রিয় ভাবে কাজ করেছেন নানা ভূমিকায়। 

১৯৫৭ সালে কুড়িগ্রামের কোদালকাটিতে আব্দুস সোবহান ও কুলসুম বেওয়ার ঘরে জন্মগ্রহণ করেন তারামন বিবি। আরো ৭ ভাইবোনকে নিয়ে অভাবের সংসারে একটু সচ্ছলতার আসায় অন্যের বাড়িতে গৃহস্থালির ছোটখাটো কাজ করতেন শৈশব থেকেই।

১৯৭১ সালের চৈত্র মাসে আজিজ মাস্টার নামে একজন তাকে মুক্তিযোদ্ধা হাবিলদার মুহিবের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন। হাবিলদার মুহিবের অনুরোধে তারামন বিবিকে তার বাবা-মা দশঘরিয়া মুক্তিযোদ্ধা ক্যাম্পে রান্নার কাজ করে দেওয়ার জন্য পাঠাতে রাজি হন। যদিও তৎকালীন পরিস্থিতিতে তারা কিছুতেই রাজি ছিলেন না তারামন বিবিকে সেখানে পাঠাতে।

কিছুদিনের মধ্যে মুহিব তাকে অস্ত্র চালনা করা শেখালেন যাতে তিনি সরাসরি যুদ্ধে অংশ গ্রহণ করতে পারে। ১৪ বছরের এই কিশোরী বুঝতেই পারেননি যে তিনি ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের একজন সৈনিক হিসেবে কাজ করতে শুরু করেছেন বাংলাদেশের স্বাধীনতার লাল সূর্য ছিনিয়ে আনতে।

১৯৭১ সালের শ্রাবণ মাসের কোনো এক বিকেলে তারামন বিবি পাক বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রথম অস্ত্রধারণ করেন। পাক বাহিনী গান-বোট নিয়ে হঠাৎ মুক্তিযোদ্ধাদের ক্যাম্পে আক্রমণ করলে অনেকটা আকস্মিকভাবেই তিনি অস্ত্র তুলে নেন।

এরপর তিনি ১১ নাম্বার সেক্টরের সেক্টর কমান্ডার বীর উত্তম আবু তাহেরের নেতৃত্বে পাক বাহিনীর বিরুদ্ধে আরো অনেক মুখোমুখি যুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেন। যুদ্ধের পর ১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবরের সরকার তার সাহসিকতার জন্য ‘বীর প্রতীক’ উপাধিতে ভূষিত করেন।

কিন্তু স্বাধীনতা যুদ্ধের পর হঠাৎ করেই তিনি প্রায় নিখোঁজই হয়ে যান। ১৯৯৫ সালে ময়মনসিংহ আনন্দ মোহন কলেজের একজন শিক্ষক তাকে খুঁজে বের করেন। তারামন জানতে পারে তিনি ছিলেন বীর প্রতীক সম্মানধারী একাত্তরের একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। ভোরের কাগজ তার সম্পর্কে প্রতিবেদন প্রকাশ করলে বিষয়টি সবার নজরে আসে।

অবশেষে স্বাধীনতার ২৪ বছর পর ১৯৯৫ সালে বীর এই নারী তার বীরত্বের স্বীকৃতি পান ১৯ ডিসেম্বর। ঐ দিন তৎকালীন সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে তার হাতে পুরষ্কার তুলে দেন। তারামন বিবিকে নিয়ে আনিসুল হকের লেখা বই ‘বীর প্রতীকের খোঁজে’। যা পরবর্তীতে নাট্যরূপ দেওয়া হয় ‘করিমন বেওয়া’।

দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর ১ ডিসেম্বর, ২০১৮ এই বীর মুক্তিযোদ্ধা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাকে রাজিবপুর উপজেলার কাচারিপাড়া তালতলা কবরস্থানে সমাধিস্থ করা হয়।

সিরাজগঞ্জে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

 সিরাজগঞ্জে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির বার্ষিক সাধারণ  সভা অনুষ্ঠিত


মাসুদ রানা,সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ  রেড  ক্রিসেন্টের  সোসাইটি  সিরাজগঞ্জ  ইউনিটের  বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার  সকালে   সরকারি  কলেজের শেখ কামাল অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সােসাইটি সিরাজগঞ্জ জেলার আয়ােজনে  এই বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিরাজগঞ্জ ইউনিটের  চেয়ারম্যান  ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান  আলহাজ্ব  আব্দুল  লতিফ  বিশ্বাস'র সভাপতিত্বে এবং জেলা আ.লীগের  ভারপ্রাপ্ত  সভাপতি  ও রেড ক্রিসেন্টের  সোসাইটি সেক্রেটারী আলহাজ্ব এ্যাডঃ কে এম হোসেন আলী হাসান'র সঞ্চালনায়  বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান  অতিথির বক্তব্যে  রাখেন,সিরাজগঞ্জ  সদর ও কামারখন্দ  আসনের  জাতীয়  সংসদ  সদস্য ও বাংলাদেশ  রেড ক্রিসেন্টে সোসাইটি  ও ম্যানেজিং বোর্ড  মেম্বার , আইএফআরসি  ভাইস চেয়ারম্যান   অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না। বিশেষ  অতিথির বক্তব্যে  রাখেন , সিরাজগঞ্জ  ইউনিটের  ভাইস চেয়ারম্যান  আলহাজ্ব  মোঃ মোস্তফা  কামাল খান প্রমূখ। এছাড়াও  অন্যান্যদের মধ্যে  বক্তব্য  রাখেন, সাবেক মহিলা সংরক্ষিত  আসনের জাতীয়  সংসদ  সদস্য  সেলিনা বেগম স্বপ্না,  রেড ক্রিসেন্টে সোসাইটির আজীবন  সদস্য  ও জেলা আ.লীগের  ভারপ্রাপ্ত  সাধারণ  সম্পাদক  মোঃ আব্দুস সামাদ তালুকদার , ইউনিটের  কার্য নির্বাহী পরিষদের  সদস্য দানিউল হক মোল্লা,পৌর প্যানেল মেয়র  ও প্রেসক্লাবের সভাপতি  হেলাল উদ্দিন , আজীবন  সদস্য  আসাদ উদ্দিন  পবলু, ডাঃ মোঃ জাহিদুল ইসলাম  হিরা, সাবেক অধ্যক্ষ এস এম মনোয়ার হোসেন প্রমূখ। অনুষ্ঠানে অতিথিরা বলেন, রেড ক্রিসেন্ট মানবতার সেবায় দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে। যেকোনাে প্রকার দুর্যোগকালীন সময়ে রেডক্রিসেন্ট মানুষের পাশে গিয়ে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেয়।নিজ পরিবারের মতাে মনে করে তাদের সকল সুখ দুঃখ রেড ক্রিসেন্টের সদস্যরা নিজের করে নেয়। বিশেষ করে সিরাজগঞ্জে  বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, ও নানারকম প্রাকৃতিক বিপর্যয় রেডক্রিসেন্ট নিজের প্রাণ বিপন্ন করে সাধারণ মানুষের সেবায় সর্বদা নিয়ােজিত ছিল। সিরাজগঞ্জে রেডক্রিসেন্ট ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করে অনেক সুনাম অর্জন করেছে বিভিন্ন জায়গায় । 

দ্বিতীয়  অধিবেশনে  কার্য নির্বাহী পরিষদের  ২০২১-২০২৩ সাল মেয়াদি  নর্ব নিবার্চিত কমিটি ঘোষনা করা হয়। এতে আলহাজ্ব  মোঃ মোস্তফা  কামাল খানকে ভাইস চেয়ারম্যান ও আলহাজ্ব এ্যাডঃ কে এম হোসেন আলী হাসানকে সিরাজগঞ্জ  ইউনিটের রেড সোসাইটি সেক্রেটারী করা হয়।  অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না,আলহাজ্ব  মোঃ বেলাল হোসেন, মোছাঃ আশানুর বিশ্বাস , দানিউল হক মোল্লা,মোঃ ফিরোজ তালুকদার  কার্য নির্বাহী সদস্য   হিসেবে  ঘোষণা  করা হয়। এ সময় আব্দুস সবুর মোল্লা পর্যবেক্ষণ  ও উপপরিচালক  জাতীয়  সদর দপ্তর সহ ৯ টি উপজেলা থেকে আসা রেড ক্রিসেন্টের  সোসাইটি সিরাজগঞ্জ ইউনিটের   আজীবন সদস্য ,যুব রেড ক্রিসেন্টে নেতৃ বৃন্দরা উপস্থিত  ছিলেন।

ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট সহ গ্রেপ্তার -৩

ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট সহ গ্রেপ্তার -৩


মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃবগুড়ায় গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পৃথক অভিযানে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট ও ৫০০ গ্রাম গাঁজাসহ ২ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে সদরের চারমাথা বাসস্ট্যান্ড এলাকা ও সোনাতলা উপজেলা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার হওয়া ওই ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট হলো রংপুরের মিঠাপুকুর থানার বড় হযরতপুর বুজরুক নূরপুরের আব্দুর রউফ ওরফে সাত্তারের ছেলে আতিকুর রহমান ওরফে ফরিদ মিয়া (২৭)। এছাড়াও অপর দুই মাদক ব্যবসায়ী হলো সোনাতলা উপজেলার হাঁসরাজের মৃত আফসার মন্ডলের ছেলে জাহিদুল ইসলাম (৩৭) ও ইব্রাহিম মন্ডলের ছেলে রেজাউল করিম।

সোমবার দুপুরে ডিবির পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মাসুমা খাতুন নামে এক নারী রোববার শ্বশুর বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি দিনাজপুর যাবার উদ্দেশ্যে চারমাথা বাসস্ট্যান্ডে যায়। এসময় আতিকুর রহমান ওরফে ফরিদ মিয়া  নিজেকে সিআইডি ও দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট বলে পরিচয় দিয়ে ওই নারীকে বলেন 'আপনার মাস্ক কোথায়? করোনার সময় আপনি মাস্ক ব্যবহার করেননি কেন? এই অপরাধে মোবাইল কোর্টে আপনার জরিমানা করা হবে।'

বিষয়টি জানতে পেরে ডিবির একটি টিম সন্ধ্যার দিকে চারমাথার আকবরিয়া টার্মিনাল ক্যাফের সামনে থেকে প্রতারক আতিকুরকে গ্রেফতার করে। এসময় গ্রেফতার হওয়া আতিকুরের কাছে  দুইটি ভুয়া পরিচয় পত্র পাওয়া যায়। একটি পরিচয়পত্রে ইংরেজিতে C.I.D, MOST WANTED, CRIME INVESTIGATION DEPT., Name: Atikur Rahman, Rank: Asst. commissioner and Executive Magistrate এবং  দুর্নীতি দমন কমিশনের অপর ১টি যেখানে DENTITY CARD,  Name: Atikur Rahman, Designation: Asst. commissioner and Executive Magistrate লেখা ছিলো।

অন্যদিকে তাদের অপর একটি টিম বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের হরিখালী বাজার এলাকা থেকে ৫০০ গ্রাম গাঁজাসহ জাদিদুল ও রেজাউলকে গ্রেফতার করে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, গ্রেফতার আসামীদের বিরুদ্ধে বগুড়া সদর ও সোনাতলা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সহিংসতা প্রতিরোধে পুলিশ সদস্যদের আরো বেশী সচেনতন ও যত্নশীল হতে হবে

সহিংসতা প্রতিরোধে পুলিশ সদস্যদের আরো বেশী সচেনতন ও যত্নশীল হতে হবে

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম (বার) বলেছেন, লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে পুলিশ সদস্যদের আরো বেশী সচেনতন ও যত্নশীল হতে হবে। থানায় আগত সেবাগ্রহীতা সকলের সাথে বিশেষ করে নারী ও শিশুর প্রতি শতভাগ সহযোগিতাপূর্ণ মনোভাব রেখে সর্বদা সংবেদনশীল আচরণ করতে হবে।

বগুড়া পুলিশ লাইন্স অডিটোরিয়ামে জেলা পুলিশের আয়োজনে এবং ইউএনএফপিএ বাংলাদেশের সহযোগিতায় "ক্যাপাসিটি বিল্ডিং ট্রেনিং ফর পুলিশ অফিসার্স অন এসওপি টু প্রিভেন্ট জিভিবি" শীর্ষক লিঙ্গ সহিংসতা প্রতিরোধে আরো শক্তিশালীভাবে কাজ করতে পুলিশ সদস্যদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধিতে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি উপোরোক্ত কথাগুলি বলেন। অনুষ্ঠানে এসপি আলী আশরাফ আরো বলেন, সারা বাংলাদেশে বগুড়াতেই প্রথম একযোগে জেলার ১২টি থানায় অবস্থিত নারী ও শিশু হেল্প ডেস্কের মাধ্যমে সেবাপ্রদানে ব্যাপক ইতিবাচক সাড়া মিলেছে এবং উপকৃত হয়েছে হাজারো সেবাগ্রহীতা।

বাংলাদেশ পুলিশের কর্ণধার আইজিপি ড. বেনজীর আহম্মেদের নেতৃত্বে সেবা প্রদানে বগুড়ায় পুলিশিং কার্যক্রম আরো আন্তরিক ও জনবান্ধবকরণের মাধ্যমে সকলকে সাধারণ মানুষের কল্যাণে কাজ করতে হবে। সেক্ষেত্রে থানায় আগত সেবাগ্রহীতাদের সেবা প্রদানে কোন গাফিলতি হলে তা সহ্য করা হবেনা মর্মে হুশিয়ারীও দিয়েছেন এই কর্মকর্তা।

ইউএনএফপিএ'র বগুড়া জেলা প্রতিনিধি তামিমা নাসরিনের পরিচালনায় কর্মশালায় পর্যায়ক্রমে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার যথাক্রমে আলী হায়দার চৌধুরী (প্রশাসন), আব্দুর রশিদ (অপরাধ), মোতাহার হোসেন (ডিএসবি), রফিকুল আলম (ইন-সার্ভিস) এবং সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (গাবতলী সার্কেল) সাবিনা ইয়াসমিন প্রমুখ। দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় জেলার ১২টি থানার নারী ও শিশু হেল্প ডেস্কের কর্মকর্তাবৃন্দসহ বিভিন্ন পর্যায়ের প্রায় অর্ধশত পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্য অংশগ্রহণ করেন।

যশোর শহরের ৩টি হাসপাতালে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

যশোর শহরের ৩টি হাসপাতালে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

মোরশেদ আলম,যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধিঃলাইসেন্স, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, ডাক্তার, ডিপ্লোমা নার্সসহ অনেক কিছু না থাকায় যশোরের ৩টি স্বাস্থ্যপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। একই সাথে ওই ৩টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়েছে। দিনের পর দিন বিধি উপেক্ষা করে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে চলা যশোর শহরের ওই প্রতিষ্ঠানগুলোকে কাগজপত্র হালনাগাদ করতে সময় বেধে দেয় স্বাস্থ্যবিভাগ পরিচালিত মোবাইল কোর্ট। এছাড়া চলতি সপ্তাহে যশোর শহরে, ঝিকরগাছা ও চৌগাছায় পরিচালিত অভিযানে ১০টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। যশোরে স্বাস্থ্যসেবা সেক্টরে অনিয়ম অসংগতি রুখতে এ অভিযান অব্যাহত রাখা হবে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন।সিভিল সার্জন অফিস ও ম্যাজিস্ট্রেট আদালত সূত্র জানিয়েছে, সংঘবদ্ধ অসাধু চক্র যশোর শহরসহ অনেক স্পটে অবৈধভাবে হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার চালিয়ে যাচ্ছে। অনেক প্রতিষ্ঠানকে দফায় দফায় সতর্ক করলেও তারা সতর্ক না হয়ে উল্টো রোগী সেবার নামে প্রতারণায় নেমেছে। স্বাস্থ্য বিভাগের কোন অনুমোদন ছাড়াই শয্যাও খোলা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমতি নেই, ডাক্তার নার্স নেই। এরপরও প্রতিদিন রোগী দেখা হচ্ছে, রোগী ভর্তি রাখা হচ্ছে, প্যাথলজিক্যাল নানা পরীক্ষা নিরীক্ষাও করা হচ্ছে। এসব ভয়ংকর সব ব্যাপার প্রতিরোধ করতে গত জুলাই ও আগস্টে বার বার নোটিশ করা হয়, অভিযান চালানো হয়। তারপরও শুধরাইনি অনেকেই। যশোর শহরের ৩টি হাসপাতালের বিরুদ্ধে ৩০ নভেম্বর দুপুর সাড়ে ১২ টায় অভিযান পরিচালিত করা হয়। যশোরের সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীনের উপস্থিতিতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল হাসান মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এসময় ঘোপ সেন্ট্রাল রোডের মিড পয়েন্ট কর্তৃপক্ষকে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানটির কোনো অনুমোদন নেই। প্রয়োজনীয় কোনো কাগজপত্রও নেই। সার্বক্ষনিক একজন মেডিকেল অফিসার, সার্বক্ষনিক ডিপ্লোমা নার্স থাকতে হবে, যা এই প্রতিষ্ঠানে নেই। এছাড়াও আধুনিক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া কাগজপত্র হালনাগাদ করতে ৭ দিনের সময় বেধে দেয়া হয়। শহরের ফোর্টিস কর্তপক্ষকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এই প্রতিষ্ঠানে শয্যা নেই, ডাক্তার নেই, নার্স নেই। এরপরও পরীক্ষা নীরিক্ষা করা হয় রোগীর। অভিযানিক টিমে আরো উপস্থিত ছিলেন ডাক্তার রেহ নেওয়াজ রনি। যশোর কোতোয়ালি থানা পুলিশ মোবাইল কোর্ট অভিযানে সহযোগিতা করেন।এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন জানিয়েছেন, অনেকগুলো নেই নেই এর মধ্যে চলছে ওই প্রতিষ্ঠানগুলো। তাদেরকে বারবার নোটিশ করা হয়েছে কাগজপত্র হালনাগাদ করতে। কিন্তু প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ কিছুই করেননি। লাইসেন্স না থাকা, প্যাথলজি সমস্যা, ডাক্তার নার্স না থাকায় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তাদের ত্রুটিগুলো শুধরে নিতে সময় বেধে দেয়া হয়েছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আরএমও ডা: লিমন পারভেজ

 ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আরএমও ডা: লিমন পারভেজ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) হিসেবে দ্বায়িত্ব গ্রহণ করেছেন ডা: লিমন পারভেজ।

মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১ মাসের জন্য তিনি এ দ্বায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। আরএমও ডা: অপুর্ব কুমার সাহা পারিবারিক ছুটিতে যাওয়ায় তার স্থানে ডা: লিমন পারভেজ দ্বায়িত্ব পালন করবেন।

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নাড়িকেলবাড়িয়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাদৎ হোসেনের সন্তান লিমন পারভেজ ৩৯ তম বিসিএস এর মাধ্যমে ২০১৯ সালের ৮ ডিসেম্বর স্বাস্থ্য বিভাগে যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকে তিনি ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে সুনামের সাথে চিকিৎসা সেবা প্রদাণ করে আসছেন। মহামারি করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা হিসেবে তিনি রোগিদের সেবা প্রদাণ করে আসছেন। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে আবারো সেবা প্রদাণ শুরু করেছেন। ভারপ্রাপ্ত আরএমও হিসেবে দ্বায়িত্ব পালনে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

নওগাঁর পোরশায় যুবলীগের বিক্ষোভ র‌্যালি অনুষ্ঠিত

নওগাঁর পোরশায় যুবলীগের বিক্ষোভ র‌্যালি অনুষ্ঠিত


রাজশাহী ব্যুরোঃ নওগাঁর পোরশায়  যুবলীগের উদ্যোগে জঙ্গিবাদ, সম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে।গতকাল  সোমবার বিকালে বিক্ষোভ র‌্যালিটিতে নেতৃত্বদেন যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ  রবিউল ইসলাম। র‌্যালিটি দলীয় কার্যালয় থেকে বের হয়ে  বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে আবারও দলীয় কার্যলয়ের সামনে শেষ হয়। অংশগ্রহণ করেন  আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক  মোঃ আবদুল ওয়াদুদ, তিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ এনামুল হক, যুবলীগ সহ-সভাপতি মোঃ এনামুল হক, সাধারন সম্পাদক মোঃ  মাহমুদুল হাসান খোকন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মোঃ  রবিউল ইসলাম সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি,
 সম্পাদক সহ নেতৃবৃন্দ ৷ 

আত্রাইয়ের বন কর্মকর্তার অবশেষে বদলি

আত্রাইয়ের বন কর্মকর্তার অবশেষে  বদলি

রাজশাহী ব্যুরোঃ গত ২৩ নভেম্বর দৈনিক আত্রাই অনলাইন নিউজ পোর্টালে বন কর্মকর্তার দম্ভ, নিউজ করেন কিছুই করতে পারবেন না শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর সেই অসাধু দাম্ভিক আত্রাই বন কর্মকর্তা(ফরেস্টার) এবং তাকে সাহায্যকারী নওগাঁ জেলা বন কর্মকর্তা(রেঞ্জার) দ্বয়কে বদলি করা হয়েছে। নওগাঁ জেলা বন কর্মকর্তা(রেঞ্জার)কে সাপাহার উপজেলায় এবং একই উপজেলার শিরোন্টি নামক বিটে আত্রাই বন কর্মকর্তা(ফরেস্টার)কে বদলি করা হয়েছে বলে নওগাঁ জেলা সহকারী বন সংরক্ষক(এসিএফ) সোমবার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
ঘটনার বিবরনিতে জানা যায়,নিউজ করলেন তদন্ত হলো প্রমানও পেলো বদলির আদেশ হলো সেটা আবার বন্ধ করে এখনও আপনাদের এখানে চাকুরী করছি। যত ইচ্ছা নিউজ করেন কিছুই করতে পারবেন না। আমি নেহায়েত চাকুরী করছি তা-না হলে, কী হতো ? ছড়ি ভাই আমি সে ভাবে বলতে চাইনি। ২২নভেম্বর রোববার আত্রাই বন বিভাগের নার্সারীতে বৃষ্টিতে ভিজে উই পোকায় খেয়ে নষ্ট হতে যাওয়া সরকারী গাছের ছবি তুলতে গেলে সাংবাদিকদের সাথে এমন দাম্ভিকতার সুরে কথা বলছিলেন আত্রাই উপজেলা বন কর্মকর্তা (ফরেস্টার) মোজাম্মেল হক। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন এতো সাধু লোক কোথায় পাবেন ? আমি সততার সাথে চাকুরী করছি। আমার সবকিছু জেলা বন কর্মকর্তা (রেঞ্জার) জানেন।
গত ৬ মার্চ ২০১৯ তারিখে আত্রাইয়ে বন কর্মকর্তার যোগসাজসে টেন্ডার ছাড়া রাস্তার গাছ কর্তন শিরোনামে দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটি রাজশাহী বিভাগীয় বন কর্মকর্তার(ডিএফও)দৃষ্টিগোচর হলে তৎক্ষনাত নওগাঁ জেলা সহকারী বন সংরক্ষক(এসিএফ) কে তদন্তের দায়িত্ব দেন। তদন্ত কর্মকর্তা (এসিএফ) গত ৯ মার্চ ২০১৯ তারিখে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের সত্যতা পান বলে সাংবাদিকদের অবগত করেন। তিনি রিপোর্টের বিষয়ে বলেন ২/৩ দিনের মধ্যে বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রাজশাহী বরাবর পাঠিয়ে দিব। সে মোতাবেক রিপোর্ট পেয়ে রাজশাহী বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) আত্রাই উপজেলা বন কর্মকর্তা (ফরেস্টার) মোজাম্মেল হককে রাজশাহীর বাগমাড়া উপজেলায় বদলির আদেশ দেন। আদেশ দেওয়ার কয়েক দিনের মধ্যে অদৃশ্য কারনে সেই আদেশ স্থগিত করেন। তার পর থেকে ধরাকে সরা জ্ঞান করে পুনরায় নাম্বার বিহিন রাস্তার গাছ বিক্রি, মুজিব বর্ষের চারা তৈরীর টাকা নয়ছয়, মুজিব বর্ষের চারা নার্সারীতে রেখে রেজিস্টারে বিতরণ দেখানো ইত্যাদি বিষয়ে একের পর এক অনিয়ম করে চলেছেন মোজাম্মেল হক ।

নওগাঁর সাপাহারে বে-সরকারি ক্লিনিকে জরিমানা

নওগাঁর সাপাহারে বে-সরকারি ক্লিনিকে জরিমানা

রাজশাহী ব্যুরোঃ নওগাঁর সাপাহারে ৪ টি বে-সরকারি ক্লিনিকে  অভিযানে ভোক্তা অধিকার আইনে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 
এতে পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহরাব হােসেন।

 গতকাল সোমবার বেলা ১২ টা হতে ৩ টা পর্যন্ত  বিভিন্ন বে-সরকারি ক্লিনিকগুলোতে এ অভিযান চালানো হয়। এসময় সার্বিক পরিবেশ, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা,যথাযথ কর্তৃপক্ষের আইনানুগ অনুমোদন ব্যতিরেকে ক্লিনিক পরিচালনা,সার্বক্ষণিক প্রয়োজনীয় সংখ্যক ডাক্তার-নার্স না থাকায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে দি নিউ পপুলার ক্লিনিকের ১৫ হাজার, সিটি ক্লিনিকের ২০ হাজার, জনসেবা ক্লিনিকের ২০ হাজার ও রয়েল ক্লিনিকের ২০ হাজার টাকা করে মোট ৭৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেন নির্বাহী  ম্যাজিস্ট্রেটের
ভ্রাম্যমাণ আদালত। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহরাব হোসেন জানান, ভবিষ্যতেও জনস্বার্থে এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

মণিরামপুর পৌরসভা এলাকায় নির্বাচনী আমেজ শুরু হয়েছে পুরোদমে

মণিরামপুর পৌরসভা এলাকায় নির্বাচনী আমেজ শুরু হয়েছে পুরোদমে

স্টাফ রিপোর্টার: তফশিল ঘোষণা হয়নি, তারপরও মণিরামপুর পৌরসভা এলাকায় নির্বাচনী আমেজ শুরু হয়েছে পুরোদমে। সম্ভাব্য প্রার্থীরা প্রতিনিয়ত ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। দোয়া প্রার্থনা করে সম্ভাব্য অনেক প্রার্থী পোস্টার, বিলবোর্ড সেটেছেন পাড়া মহল্লার রাস্তার মোড়ে মোড়ে। ভোটারদের আশীর্বাদ নিতেই সকাল সন্ধ্যা মহল্লায় মিলছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের। আগাম ভাবেই প্রতিশ্রুতি গান শুনাচ্ছেন ভোটারদের। কাউন্সিলর পদে ডজন ডজন সম্ভাব্য প্রাথী তো আছেই। এরই মাঝে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে চারজনকে আপাতত মাঠে ময়দানে দেখা মিলছে।

এদিকে দীর্ঘ ২৩ বছরের পৌর এলাকায় কে কি উন্নয়ন করেছেন তার হিসাব-নিকেশ কষতে শুরু করেছেন ভোটাররা। মণিরামপুর পৌরসভাটি এখন প্রথম শ্রেণির মর্যাদার হলেও পৌর এলাকায় ঢুকলে যেন মনেই হবে না এটা পৌর এলাকা। কাক্সিক্ষত নেই নাগরিক সুবিধা, কেবল মাত্র ভোটরদের ঘাড়ে চাঁপানো হয়েছে করের বোঝা। এ কারণে কোনো প্রার্থীকে নির্বাচিত করলে জনগণের উন্নয়ন হবে, জনগণ পৌরসভার কাছ থেকে নাগরিক সুবিধা পাবে এসব নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। ভোটারদের মুখে এখন একটায় আলোচনা যোগ্য ব্যক্তিকেই পৌর অভিভাবক নির্বাচিত করা হবে। পৌর এলাকায় নেই কোনো কাক্সিক্ষত ড্রেনের ব্যবস্থা, যেখানে সেখানে ময়লা আর্বজনার স্তূপ রয়েছেই। বিভিন্ন ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে রাস্তা ঘাটের দুরাবস্থাও কাটেনি এখনো। ৯৭ সালে স্থাপিত হয় পৌরসভাটি। বর্তমান মেয়াদে প্রথম শ্রেণিতে উন্নিত করা হয়েছে। দীর্ঘ ২৩বছরের মধ্যে মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা আমজাদ হোসেন লাভলু, থানা বিএনপির সভাপতি অ্যাড. শহীদ মোঃ ইকবাল হোসেন এবং বর্তমানে দায়িত্বে আছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ কাজী মাহমুদুল হাসান। তিনি আবারও দলীয় টিকিটেই মেয়র পদে নির্বাচন করতে চান। মনোনয়ন পেতে দলীয় নীতি নির্ধারকদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা ছাড়াও ভোটারদের সাথে মতবিনিময় করে চলেছেন। তিনি নিয়মিত বিভিন্ন ওয়ার্ডে যাচ্ছেন ভোটারদের কাছে। বসে নেই সাবেক মেয়র বিএনপির শহীদ ইকবালও। থানা বিএনপির সভাপতি অ্যাড. শহীদ মোঃ ইকবাল হোসেন বেশ জোরেশোরেই নির্বাচনী কার্যক্রম করে চলেছেন। নিয়মিত ৯টি ওয়ার্ডে ভোটারদের মুখোমুখি হচ্ছেন ২০০৪ এবং ২০১০ সালে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হন। এবার তিনি আগে ভাগেই জনগণের দোরগোড়ায় যাচ্ছেন। প্রতিদিন সকাল-সন্ধ্যা কোনো না কোনো ওয়ার্ডের জনগণের সাথে থাকছেন।

পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর প্যানেল মেয়র-১ কামরুজ্জামান কামরুল দলীয় মনোনয়ন পেতে মাঠে নেমেছেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মরহুম গোলাম মোস্তফার জ্যৈষ্ঠ পুত্র কামরুজ্জামান মোহন ওয়ার্ড থেকে দু’বার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন।  ইতোমধ্যে বিভিন্ন ওয়ার্ড পরিক্রমা ছাড়াও পৌর এলাকায় ভোটারদের উদ্দেশ্যে দোয়া প্রার্থনা করে পোস্টার, বিলবোর্ড সেটেছেন। তিনি আশাবাদী দলীয় মনোনয়ন পেলে বিপুল ভোটেই নির্বাচিত হতে পারবেন।

ব্যবসায়ী আসাদুজ্জামান আসাদ মেয়র পদে আ.লীগের মনোনয়ন পেতে ছুটছেন পৌর এলাকার ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। হাকোবা গ্রামের মরহুম গোলাম নবীর ছেলে আসাদুজ্জামান আসাদ ঠিকাদারী ব্যবসা ছাড়াও বিভিন্ন ব্যবসার সাথে যুক্ত । এর মাঝেও ছয় বছর তিনি যশোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর পরিচালক পদে নির্বাচিত হন। তিনবার পরিচালনা বোর্ডের সভাপতিও ছিলেন । আওয়ামী লীগ ঘরানার এই নেতা সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন লাভলুর ছোট ভাই। ১৯৮৬ সালে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ৮৮ সালে মণিরামপুর ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং ৯০’ এ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। ৯৪’তে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি, ৯৭’তে পুনরায় ছাত্রলীগের উপজেলা সভাপতি নির্বাচিত হন। পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন ২০০৪ সালে।

এই চার নেতার বাইরেও আরো কয়েক নেতা মেয়র পদে নির্বাচন করবেন এমন কথা শোনা যাচ্ছে। এরমধ্যে আওয়ামী লীগের এক প্রভাবশালী নেতা এবং বিএনপির আর এক নেতা দলীয় মনোনয়ন চাইতে পারেন।

মানিকগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেয়েছেন সাবেক মেয়র রমজান আলী

মানিকগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেয়েছেন সাবেক মেয়র রমজান আলী

 


আব্দুর রাজ্জাক, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধিঃমানিকগঞ্জ জেলা সদর উপজেলা আসন্ন ২৮ ডিসেম্বর মানিকগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদ প্রার্থী সাবেক মেয়র জনাব রমজান আলী নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে পেয়েছে।একাদিক বার আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে  মনোনয়ন পেয়েছেন।এবারও  তিনি নৌকা প্রতিক পেয়েছেন সাবেক মেয়র মো. রমজান আলী।তিনি বলেন এবার  নৌকা প্রতিক নিয়ে মেয়র নির্বাচনে বিজয় হবেন।

শনিবার (২৮ নভেম্বর) আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ড ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়।ঘোষণা অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১ ডিসেম্বর। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ৩ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১০ ডিসেম্বর। আর ভোট গ্রহণ ২৮ ডিসেম্বর। ঘোষণা করা হয়েছে।