বাবা-মায়ের ওপর অভিমান করে ৭ম শ্রেণি ছাত্রীর আত্মহত্যা

মো. মিজানুর রহমান মিজান, চিরিরবন্দর, দিনাজপুর, প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় বাবা-মায়ের প্রতি অভিমান করে মারিয়া খাতুন (১৩) নামে ৭ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী আত্বহত্যা করেছে। মৃত স্কুল ছাত্রী ভেড়ভেড়ী ইউনিয়নের তেবাড়িয়া চৌধুরীপাড়ার মোহাজ্জের রহমানের ছোট মেয়ে ও সখিনা ফজলুল হক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী।

পুলিশ ও এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, সোমবার সকালে মারিয়ার বাবা-মা তাকে মারধর ও বকাবকি করে। পরে বাবা-মা ক্ষেতে কাজ করতে গেলে মারিয়া তার শয়নকক্ষে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। তার মা বাড়িতে ফিরে এসে তাকে ডাকার পর সাড়া না পেয়ে তার শয়ন কক্ষে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চেঁচামেচি করে। পরে বাড়ির আশেপাশের লোকজন মারিয়াকে নামিয়ে পাকেরহাট হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডিউটিরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।  এ বিষয়ে ওসি শেখ কামাল হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম.আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিক তদন্ত ও ময়নাতদন্তের রির্পোট আসার পর আত্মহত্যার প্ররোচণাকারী হিসবে কারো সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা