ভেঙেছে কালভার্ট ও মাটি নেই ব্রীজের গোড়ায়, পায় হাটাও দায়

ভেঙেছে কালভার্ট ও মাটি নেই ব্রীজের গোড়ায়, পায় হাটাও দায়

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার 
ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার ধানসিঁড়ি নদীর পূর্বপাড়ের অবহেলিত একটি গ্রামের নাম পশ্চিম চর ইন্দ্রপাশা। এ গ্রামে অধিকাংশ দরিদ্র, দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষদের আশ্রয়ে সরকার গুচ্ছগ্রাম, আবাসন ও ভুমিহীন পরিবারকে বসবাসের জন্য এরশাদ সরকারের আমলে জমি ও পরবর্তীতে গুচ্ছগ্রাম, আবাসনে ঘর বরাদ্দ দেয়া হয়। পরে প্রায় ২ যুগ আগে পশ্চিম ইন্দ্রপাশা-ভূমিহীন-গুচ্ছগ্রাম এলাকায় ধানসিঁড়ি নদীর পূর্বপাড় থেকে প্রায় ৩ কি.মি দীর্ঘ মাটির রাস্তাটিতে ইট দিয়ে ইটের রাস্তা নির্মান করা হয়। কিন্তু বর্ষা ও বন্যায় রাস্তাটির বিভিন্ন এলাকা তলিয়ে রাস্তা ভেঙে যায়। ভূমিহীনের উত্তর প্রান্তের কালর্ভাটিও ভেঙে নিশ্চিহ্ন হয়ে যায় এবং গুচ্ছ গ্রাম এলাকার ধানসিঁড়ি শাখা খালের ব্রীজের গোড়ায় মাটি না থাকায় যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া ইটের এ রাস্তাটির বিভিন্ন স্থানের ইট ভেঙে সড়ে গিয়ে একেবারে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, ৩ কি.মি. দীর্ঘ ইট সলিং রাস্তাটি সংস্কার না হওয়ায় অসংখ্য খানা খন্দের কারণে যানবাহন ও মানুষের চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে ফলে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। রাস্তায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, মঠবাড়ী ইউনিয়নের চর ইন্দ্রপাশা গ্রামের এ রাস্তাটি দিয়ে হাসপাতাল, স্কুল, কলেজ, ব্যাংক, বীমা, পোস্ট আফিস, ইউনিয়ন পরিষদ, থানা, বিভিন্ন এনজিও অফিসসহ গুরত্বপূর্ণ অফিসে যাতায়াতে করে এ এলাকার বসতিরা। রাস্তাটি ভেঙেচুড়ে একাকার হওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে কয়েক হাজার পথচারি ও বসবাসকারী সাধারন মানুষকে। দীর্ঘদিন ধরে রিক্সা-ভ্যান চলাচল বন্ধ থাকায় বেশি ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে বৃদ্ধ রোগী ও শিশু শিক্ষার্থীসহ মালামাল বহনকারীরা। বাগড়ি বাজার সংলগ্ন চর ইন্দ্রপাশা ব্রীজ থেকে উত্তর দিকে ভূমিহীন, গুচ্ছগ্রাম ও আশ্রয়ন কেন্দ্র রাস্তাটিতে অটোরিকশা, মোটর সাইকেল ও ভ্যানসহ সকল যানবাহন চলাচল কয়েক বছর ধরে বন্ধ। সামান্য বৃষ্টিতে রাস্তার অবস্থা আরো ভংঙ্কর হয়ে পরে। এ রাস্তাটিতে ১টি ব্রীজ ও ২টি কালভার্ট রয়েছে। ব্রীজের দুই পাশের রাস্তার ইট ও মাটি সড়ে গিয়েছে। কালভাট ভেঙে যাওয়ায় চলাচল বন্ধ। স্থানীয়দের অভিযোগ, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান অতিনিম্নমানের মালামাল দিয়ে কালভার্ট নির্মাণ করায় তা ভেঙে গেছে। স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান আহম্মেদ খান দুঃখ প্রকাশ করে জানান, রাস্তা বেহালের কারণে অটোরিকশাসহ কোন প্রকার যানবাহন চলে না। দীর্ঘ কয়েক বছরে সংষ্কার না হওয়া অযতেদ্রুত, অবহেলায় এবং কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টির অভাবে সড়কটির এমন দশা। কলেজ শিক্ষার্থী রফিকুল ইসলাম শান্ত জানান, অসুস্থ রোগী দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যেতে তাদের চরম ভোগান্তিতে পরতে হয়। রাস্তা খারাপের কারণে কোনো গাড়ী বা অ্যাম্বুলেন্স ডুকে না এ রাস্তায়। রাস্তার ইট উঠে খানাখন্দে ভরে গেছে। অনেকাংশে রাস্তার ইটের কোনও অস্তিত্ব নেই সব বিলীন হয়ে গেছে। সংস্কারের অভাবে রাস্তাগুলোর অন্তত ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ স্থান বেহাল অবস্থায় রয়েছে। এ গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটির দ্রুত সংষ্কারে কর্তৃপক্ষ সহযোগিতা চেয়েছেন। মঠবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল সিকদার জানান, সড়কটি ইতোমধ্যে জেলা উন্নয়ন প্রকল্পে তালিকাভূক্ত করা হয়েছে। রাস্তাটি দ্রুত সংষ্কার হওয়া দরকার। রাস্তাটি বেহাল হওয়ার কারনে দীর্ঘদিন ধরে মানুষ ভোগন্তি পোহাচ্ছে, আশা করি দ্রুত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ রাস্তাটি সংষ্কার করবে। রাজাপুর উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা ও সার্ভেয়ার সুমন হোসেন জানান, খোজঁখবর নিয়ে জেলা উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে রাস্তাটি দ্রুত সংষ্কার করা হবে।

রাজাপুরে ডাকাতের হামলায় পিতা-মাতা ও সন্তান আহত, হাসপাতালে ভর্তি

রাজাপুরে ডাকাতের হামলায় পিতা-মাতা ও সন্তান আহত, হাসপাতালে ভর্তি

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার 
ঝালকাঠির রাজাপুরের পুটিয়াখালি গ্রামের সোনালী মোড় এলাকায় সোমবার গভীর রাতে তালুকদার বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতের হামলায় গৃহকর্তা অটোচালক খলিলুর রহমান তালুকদার (৩৮), তার স্ত্রী বেবি বেগম (২৮) ও তার ছেলে আলামিন (১৪) আহত হয়েছে। আহত খলিল ও বেবিকে রাতেই রাজাপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। গৃহকর্তা অটোচালক আহত খলিলুর রহমান তালুকদার ও বেবি বেগম চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার বিকেলে জানান, রাত ২টার দিকে সিঁধ কেটে মুখোশধারী ৩/৪ জন ডাকাত ঘরে প্রবেশ করে দরজা খুলে দেয় ঘরের বাহিরে আরও ৪/৫ জন রামদা হাতে পাহাড়া দিচ্ছিলো। ডাকাতরা ঘরে ডুকে প্রথমে ছেলে আলামিনকে মারধর করে হাত-পা বেধে খলিল ও বেবিরও হাত-পা বাধা শুরু করলে তারা বাধা ছুটে যেতে চাইলে তাদেরকে পিটিয়ে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম ও ফুলা জখম করে। এতে গৃহকর্তা খলিল অজ্ঞান হয়ে গেলেও স্ত্রী বেবি ঘরের পেছনের দরজা দিয়ে বাহিরে বের হয়ে ডাক-চিৎকার করলে বাহিরে থাকা ডাকাতরা তার মাথায় আঘাত করে। এসময় ঘরের পাশের নালায় পড়ে অজ্ঞান হয়ে যায় বেবি। ততক্ষনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। পরে আহতদের উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। গৃহকর্তা অটোচালক খলিলুর রহমান তালুকদার আরও জানান, তিনি ও তার স্ত্রী আহত হয়ে হাসপাতালে থাকায় ডাকাতরা কি মালপত্র, টাকা ও সোনা নিয়েছেন তা সঠিকভাবে বলতে পারেননি। তবে তাদের ধারনা ঘরের সব মালপত্র লুট হয়েছে। রাজাপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে। ওসি জানান, খবর শুনে পুলিশ ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছে, তবে কাউকে আটক করতে পারেনি।

সিরাজগঞ্জে অবৈধ উপায়ে বালু উত্তোলনের দায়ে অর্থদণ্ড

সিরাজগঞ্জে অবৈধ উপায়ে বালু উত্তোলনের দায়ে অর্থদণ্ড

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জে অবৈধ উপায়ে বালু উত্তোলনের দায়ে ১ লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড  করেন সিরাজগঞ্জ সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ। তিনি বলেন মঙ্গলবার গোপন সূত্রের ভিত্তিতে অবৈধ উপায়ে বিপণনের উদ্দেশ্যে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে সংবাদ পেয়ে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সয়দাবাদ ইউনিয়নের বড় শিমুল পঞ্চসোনা নামক স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে। 
মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অপু নামক জনৈক ব্যক্তি এলাকায় অবৈধ উপায়ে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়। পরবর্তীতে বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৪ ধারার অপরাধে ১৫ ধারায় অভিযুক্ত কে  এক লক্ষ টাকা অর্থদন্ড দেয়া হয়। উক্ত,মোবাইল কোর্ট পরচালনায় ,সিরাজগঞ্জ আনসার বাহিনীর সদস্যগণ, উপজেলা ভূমি অফিসের স্টাফগণ সহযোগিতা করেন।
অবৈধ উপায়ে বালু উত্তোলন বিরোধী অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানান তিনি।

যশোরে নবাগত পুলিশ সুপারের মতবিনিময় সভা

যশোরে নবাগত পুলিশ সুপারের মতবিনিময় সভা

সুমন হোসেন,  যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ
যশোর জেলার নবাগত পুলিশ সুপার জনাব প্রলয় কুমার জোয়ারদার, বিপিএম (বার), পিপিএম মহোদয় অদ্য ০৬/০২/২০২১খ্রিঃ ১) যশোর জেলার বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, ২) যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দ, ৩) জেলা ইমাম পরিষদ ও বিভিন্ন ইসলামী নেতৃবৃন্দ, ৪) যশোর জেলার সকল পৌর মেয়র ও ৫) যশোর জেলার সকল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানগনের সাথে যশোর জেলার সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা সংক্রান্তে মতবিনিময় সভা করেন। 

তিনি নিরাপদ যশোর গড়ার লক্ষ্যে সবার সাথে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে পারস্পরিক সম্মান বজায় রেখে কাজ করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন যে, অপরাধীকে অপরাধ দিয়েই বিবেচনা করা হবে; কোন দল বা রং দিয়ে নয়। দুর্নীতির বিরুদ্ধে তিনি শূন্য সহিষ্ণুনীতি অবলম্বন করবেন। মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, চাঁদাবাজি সহ সকল ধরনের অপরাধের বিরুদ্ধে তিনি শক্ত অবস্থান নিয়ে সততা, সাহসিকতা ও আন্তরিকতার সাথে কাজ করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন। এ লক্ষ্যে তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন।এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশ যশোরের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ।

ইসলামী যুব আন্দোলন খুলনা জেলা কমিটি গঠন

ইসলামী যুব আন্দোলন খুলনা জেলা কমিটি গঠন

স্টাফ রিপোর্টার: ইসলামী যুব আন্দোলন খুলনা জেলার ৩য় যুব সম্মেলন গতকাল বিকাল তিনটায় পাওয়া হাউজ মোড়স্থ আইএবি  কার্যালয়ে ইসলামী যুব আন্দোলন খুলনা জেলা সভাপতি মাওলানা তৌহিদুল ইসলাম মামুনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়। 
যুব সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী যুব আন্দোলন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি মানসুর আহমেদ সাকি।

বিশেষ অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা জেলা সভাপতি মাওলানা অধ্যাপক আবদুল্লাহ ইমরান, জেলা সেক্রেটারি হাফেজ মাওলানা আসাদুল্লাহ গালিব, বামুক সাধারণ সম্পাদক শেখ হাসান ওবায়দুল করিম। 
প্রধান অতিথি ইসলামী যুব আন্দোলন খুলনা জেলার ২০১৯-২০ সেশনের কমিটি বিলুপ্ত করে ২০২১-২২ সেশনের নতুন কমিটির সভাপতি হিসেবে মুহাম্মদ মেহেদী হাসান, সহ-সভাপতি মাওলানা নাজিম উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ফজলুল হকের নাম ঘোষণা করেন।

সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন যুব আন্দোলন মহানগর সহ-সভাপতি মুফতি আব্দুর রহমান মিয়াজী, সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন মিয়া, জেলার সহ সভাপতি মুফতী দেলোয়ার হুসাইন , যুগ্ন সম্পাদক নাজিম ফকির, আইন সম্পাদক বেলাল হুসাইন, হাফেজ আব্দুর রশিদ, রমজান আলি মল্লিক, কয়রা থানা সভাপতি ফারুক শিকারী, মুফতী ওমর ফারুক, রাকিবুল হাসান প্রমুখ

সাংবাদিক বিজয়ের ওপর হামলার প্রতিবাদে ভূঞাপুরে মানববন্ধন

সাংবাদিক বিজয়ের ওপর হামলার প্রতিবাদে ভূঞাপুরে মানববন্ধন

টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি: 
বাংলা ট্রিবিউনের টাঙ্গাইল প্রতিনিধি মো.এনায়েত করিম বিজয়ের  ওপর হামলার প্রতিবাদে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।

আজ মঙ্গলবার ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রি.দুপুরে ভূঞাপুর-টাঙ্গাইল প্রধান  সড়কের ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের সামনে এই  প্রতিবাদ মানববন্ধন করেন সাংবাদিক নেত্ববৃন্দ ।

মানববন্ধনে উপস্থিতি ছিলেন, ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহআলম প্রামানিক, সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম কিসলু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, সাংবাদিক মিজানুর রহমান, শফিকুল ইসলাম শাহীন, অভিজিৎ ঘোষ, ইব্রাহীম ভূইয়া, আব্দুল লতিফ তালুকদার, জুলিয়া পারভেজ প্রমুখ।

লালমনিহাটে বীর মুক্তিযোদ্ধা কে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

লালমনিহাটে বীর মুক্তিযোদ্ধা কে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

রশিদুল ইসলাম রিপন, লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় ছেলের বিরুদ্ধে গরু চুরির অভিযোগ তুলে আকবর আলী ধনী নামে এক বীর মুক্তিযোদ্ধাকে বাড়ি থেকে নিয়ে গিয়ে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারী) সকাল ১০ টায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ হাতীবান্ধা শাখার আয়োজনে হাতিবান্ধা উপজেলা পরিষদ গেটের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারন সম্পাদক রনিউল ইসলাম রিপন,মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কামরুজ্জামান, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান উন্মুক্ত মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্নসাধারন সম্পাদক অাজিজুল হক,উপজেলা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আসাদুল ইসলাম কাজল,সহ-সভাপতি জামিয়ার জয় এবং ছাত্রলীগ নেতা হাসানুজ্জামান হাসান সহ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা।

এসময় বক্তারা বলেন, অতিদ্রুত এঘটনার সঠিক তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় এনে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নিতে হবে। এর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া না হলে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি পালন করা হবে বলে হুশিয়ারি দেন তারা।
উল্লেখিত গত শনিবার বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও জাতীয় পত্রিকায় উপজেলার ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের জাওরানী এলাকায় চেয়ারম্যানের বাড়িতে বীর মুক্তিযোদ্ধা আকবর আলী ধনীকে দড়ি দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের খবর প্রকাশ হয়।এতে ক্ষোভে ফেটে পড়ে এলাকাবাসী ও মুক্তিযোদ্ধারা।এদিকে হাতিবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এরশাদুল আলম জানিয়েছেন,মামলা নেয়া হয়েছে।তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিন দশকেও আধুনিক হয়নি ঝালকাঠির বাস টার্মিনাল নেই যাত্রী ছাউনি, টয়লেট কিংবা বিশ্রামাগার

তিন দশকেও আধুনিক হয়নি ঝালকাঠির বাস টার্মিনাল নেই যাত্রী ছাউনি, টয়লেট কিংবা বিশ্রামাগার

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার 
দেশের ৬৩টি জেলা শহরে আধুনিক বাস টার্মিনাল থাকলেও নেই, ঝালকাঠিতে। ৩৩ বছর আগের জরাজীর্ণ আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল নিয়ে নাজেহাল বাস মালিক সমিতি ও যাত্রীরা। বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা আর শীতে ধুলাবালিতে নাকাল সবাই।গত তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে কোনও আধুনিকতার ছোঁয়া লাগেনি ঝালকাঠির জেলা বাস টার্মিনালে। গত ৩৩ বছর ধরে বাসটার্মিনালটি চলছে সেই আগের নিয়মেই।জানা গেছে, ১৯৮৮ সালে এক একর জমির উপর স্থাপন করা হয় ঝালকাঠি জেলা বাস টার্মিনাল।

এমনই জরাজীর্ণ অবস্থা ঝালকাঠি জেলা শহরের বাস টার্মিনাল মালিক সমিতি ভবনের। নেই যাত্রী ছাউনি, টয়লেট কিংবা বিশ্রামাগার। যেখানে সেখানে ময়লা ফেলায় দুর্গন্ধে নাজেহাল যাত্রী, বাস চালক ও শ্রমিকরা। খানাখন্দে ভরে গেছে টার্মিনাল এলাকা। সীমানা প্রাচীর না থাকায় চুরি হয়ে যায় বাসের যন্ত্রাংশ। জরাজীর্ণ টিকিট কাউন্টারগুলোতে বসে থাকাও দায়।

ঝালকাঠির সাথে প্রতিদিন ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলার দুরপল্লার বাসসহ অভ্যন্তরীন ৮ রুটে শতাধিকের বেশি বাস চলাচল করে। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন জেলার সাথে সরাসরি ও ভায়া হয়ে শতাধিক যাত্রীবাহী বাস ছাড়ে এই টার্মিনাল থেকেই। এতে কয়েক হাজার যাত্রীকে চলাফেরা করতে হয় এই টার্মিনাল হয়ে। বেশিরভাগ দূরপাল্লার বাসই টার্মিনালে ঢুকতে না পারে, যাত্রী ওঠা নামা করে রাস্তায়। এতে দুর্ঘটনাও বাড়ছে দিন দিন।
সংশ্লিষ্টদের অভিযোগ, এই আন্তঃজেলা বাস ও মিনিবাস টার্মিনালে জায়গা সংকট রয়েছে। নেই কোনও সীমানা প্রাচীর, যাত্রী ছাউনি, উন্নতমানের পাবলিক টয়লেট আর বিশ্রামাগার। ডাস্টবিন ও পয়নিঃস্কাশনের ব্যবস্থা নেই বাসটার্মিনাল এলাকায়। টার্মিনাল জুড়ে রয়েছে উচুঁ-নিচুঁ গর্ত আর খানাখন্দ। এতে বর্ষাকালে জলাবদ্ধতা আর শীত বা শুষ্ক মৌসুমের ধুলা-বালিতে নাকাল যাত্রী, চালক ও হেলপারসহ এলাকাবাসী।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বাস টার্মিনাল এলাকায় একটি পাবলিক টয়লেট থাকলেও ভাঙ্গাচুরা,দূর্গন্ধ অবস্থায় অনুপযোগী হয়ে পড়ে আছে। তবুও পাবলিক টয়লেট ব্যবহারের জনপ্রতি ৫ ও ৭ টাকা করে আদায় করছে ইজারা নেয়া এক নারী । আরও দেখা গেছে, জরাজীর্ণ আর জোড়াতালি দেয়া কাউন্টারে চলছে টিকিট বিক্রির কাজ। ডাস্টবিন না থাকায় স্থানীয় দোকান ও যাত্রীদের ফেলা বর্জ্য এবং মলমূত্রের দুর্গন্ধে নাক চেপে চলাফেরা করতে হচ্ছে। এতে পরিবেশও দূষিত হচ্ছে।

এছাড়াও বাস টার্মিনালে পাকা সীমানা প্রাচীর বা কাঁটাতারের কোনও ভেড়া না থাকায় প্রায়ই বাসের ডিজেল, গিয়ার অয়েল, টায়ার, অতিরিক্ত টায়ারের রিং, সিসি ক্যামেরাসহ অনেক যন্ত্রাংশ চুরির ঘটনা ঘটছে। যার খেসারত দিতে হচ্ছে শ্রমিকদের। শাহিনুর মরিয়ম নামে এক যাত্রী জানান, ঝালকাঠি বাস টার্মিনালে আসলেই তার মনে হয় কোনও পরিত্যক্ত জায়গায় এসেছেন। নোংরা, ময়লা-আবর্জনা আর ধুলা-বালির মধ্য দিয়েই নিয়মিত বরিশালে যাতায়াত করতে হয় তাকে। অবস্থার পরিবর্তন ও যাত্রীদের দুর্ভোগ কমাতে কেউ এগিয়ে আসেন না বলেও তার অভিযোগ।

ঝালকাঠি বাস টার্মিনালে থাকা এক চালক জানান, এই বাস টার্মিনালে সমস্যার শেষ নেই। বাস নিয়ে এসে এখানে বিশ্রামেরও সুযোগ হয় না চালকদের। তাছাড়া সীমানা দেয়াল বা বেড়া না থাকায় বাসের যন্ত্রাংশ চুরি হয়। ফলে চুরি এড়াতে রাতে বাসের মধ্যেই থাকতে হয়। তিনি আরও জানান, বর্ষাকালে টার্মিনালে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। ফলে বাসের চাকা পড়লে উঠাইতেও অনেক কষ্ট হয়। তাই নিরাপদে বাস রাখা, চালক, হেলপারদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থাসহ বাস টার্মিনালটি আধুনিক করার দাবি সংশ্লিষ্টদের সবার।

এক টিকিট কাউন্টার কর্মী জানান, নোংরা পরিবেশ, পাশে ফেলানো ময়লা আর্বজনার দুর্গন্ধ ও ভাঙা কাউন্টারেই তাদের টিকিট বিক্রি করতে হয়। শুধু শুনা যায় টার্মিনালটি সংস্কার করা কিন্তু কোনও কোনও কাজ দৃশ্যমান হয় না বলেও জানান তিনি। দেশের সব জেলায় আধুনিক বাস টার্মিনাল থাকলেও নেই ঝালকাঠিতে। তাই একটি আধুনিক বাস টার্মিনালের দাবি ঝালকাঠিবাসীর।

১২ দিন অতিবাহিত হলেও ধর্ষক অধরা পুলিশ বলছে খুঁজে পাচ্ছি না

১২ দিন অতিবাহিত হলেও ধর্ষক অধরা পুলিশ বলছে খুঁজে পাচ্ছি না

ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ
০৯-০২-২১ইং
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার গুটিয়ানি গ্রামে দশম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে ধর্ষন চেষ্টা মামলায় আসামী যুগল কুমার অধরা রয়েছে। ১২দিন পর হলেও পুলিশ তাকে খুজে পাচ্ছে না। এ নিয়ে বাদির পরিবারে হতাশা নেমে এসেছে। তবে অভিযোগ উঠেছে প্রভাবশালী মহলের তদ্বীরের কারণে আসামী গ্রেফতার হচ্ছে না। ধর্ষক যুগল কুমার স্থানীয় মন্দিরের ধর্মগুরু ও গুটিয়ানি গ্রামের মৃত অশ্বিন বিশ্বাসের ছেলে। পুলিশ জানায়, গত ২৮ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে জামাল ইউনিয়নের গুটিয়ানি গ্রামে সোলারপ্লান্টের ভিতরে দশম শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রীকে ধরে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে যুগল। এ সময় স্থানীয় ঝন্টু ও হাসানসহ অনেকে উপস্থিত হলে লম্পট যুগল ওই ছাত্রীকে সেচ পাম্পের মধ্যে তালা দিয়ে রেখে পালিয়ে যায়। এদিকে লোকলজ্জার ভয়ে ওই মুসলিম স্কুল ছাত্রী ঘরের মধ্যে থাকা ঘাস মারা কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় মেয়ের মা ২৯ জানুয়ারী বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় মামলা করের। মামলার ১২দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ ধর্ষক যুগলকে গ্রেফতার করতে পারেনি। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আবুল কাসেম বলেন, আমার আসামী ধরতে সাধ্যমতো চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছি। কালীগঞ্জ থানার ওসি মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, এখনো আসামী গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে আশা করি দ্রুতই গ্রেফতার হবে।

শৈলকুপায় কলাগাছ কাটতে এসে ধাওয়া খেয়ে পালালো দুর্বৃত্তরা

শৈলকুপায় কলাগাছ কাটতে এসে ধাওয়া খেয়ে পালালো দুর্বৃত্তরা

ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ২০ শতাংশ জমির কলাগাছ কাটতে গিয়ে গ্রামবাসির ধাওয়া খেয়ে পালিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার রাতে কাচেরকোল ইউনিয়নের বালিয়াঘাট গ্রামের মাঠে এ ঘটনা ঘটে। জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে চার-পাঁচজন দুর্বৃত্ত কলাগাছ কাটতে শুরু করলে জমির মালিকের নেতৃত্বে গ্রামবাসি তাদের ধাওয়া করে। জমির মালিক রতিডাঙ্গা গ্রামের কেয়ামত মোল্লার ছেলে শহিদুল ইসলাম অভিযোগ করেন, তার জমিতে বিভিন্ন জাতের দেড় শতাধিক কলাগাছ লাগোনো হয়। দুই মাস পরে এ সব কলার কাঁদি ৮০০ টাকায় বিক্রি হবে। তিনি অভিযোগ করেন জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বালিয়াঘাট গ্রামের পিকুল, জিকু, আব্দুল মজিদ ও সবুজ তার রোপিত কলা গাছ কাটতে এসছিল বলে তিনি ধারণা করেন। এ বিষয়ে শৈলকুপা থানার ওসি (তদন্ত) মহসিন হোসেন জানান, তিনি কলাগাছ কাটার ঘটনাটি শুনেছেন। কলাগাছের মালিককে তিনি থানায় একটি অভিযোগ দিতে বলেছেন। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

নওগাঁর পোরশায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু

নওগাঁর পোরশায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু


মোঃ ফিরোজ হোসাইন,রাজশাহী ব্যুরো:নওগাঁর পোরশার তেলিপাড়া ঠাকুরনতনি বাঁকে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রন হারিয়ে সুমন ২০ নামে এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু।  মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলার তেলিপাড়া ঠাকুরনতলীতে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে। সুমন  নওগাঁ সরকারি কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে সুমন মোটরসাইকেল নিয়ে উপজেলার নোচনাহার ছাতনতলী বাজারে যায়। বাজারের কাজ শেষে মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়ির দিকে আসতেছিলেন। পথেরমধ্যে তেলিপাড়া ঠাকুরনতলী এলাকার রাস্তার বাঁকে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রন হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে রাস্তার নিচে পড়ে যায়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পোরশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ সংবাদে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।
পোরশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অফিসার ইনচার্জ শফিউল আজম খান নিজের মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রন হারিয়ে মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পটিয়ার কাঞ্চন নগর চা বাগানের পাহাড় কাটার মহোৎসব, ভারসাম্য হারাচ্ছে পরিবেশ !

পটিয়ার কাঞ্চন নগর চা বাগানের পাহাড় কাটার মহোৎসব, ভারসাম্য হারাচ্ছে পরিবেশ !

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ চট্টগ্রামের পটিয়ার লট শ্রীমাই কাঞ্চন নগর চা বাগানের রাত- দিন  পাহাড় কাটার মহোৎসব চলছে। এতে পরিবেশ ভারসাম্য হারাচ্ছে। এসব মাটি কেটে সাবাড় করছে  উত্তর কাঞ্চন নগর  ভূমিদস্যু  মাটি ব্যবসায়ীরা  শহিদুল ইসলাম ,এরশাদ,  রিদওয়ান মাহমুদ কফিল, তারা একটি সিন্ডিকেট গঠন করে স্কেবেটর দিয়ে এলাকায় নির্বিচারে পাহাড় কাটার ধুম পড়েছে।পরিবেশ অধিদপ্তরের আইন নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে প্রশাসনের কর্তাদের বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে প্রকাশ্য চলছে পাহাড় কাটার মহোৎসব। এতে করে একদিকে পরিবেশ হারাচ্ছে তার প্রাকৃতিক ভারসাম্য। অন্যদিকে পাহাড়ে বসবাসরত প্রাণীকুল হারাচ্ছে নিরাপদ আবাসস্থল। তবে এ ব্যাপারে কোন প্রকার কার্যকারী পদক্ষেপ নিচ্ছে না প্রশাসন। তাদের নির্বিকার ভুমিকা প্রশ্নের জন্ম দিচ্ছে স্থানীয়দের মনে।  বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, বিগত কয়েকমাস যাবৎ এলাকার বেশ কিছু প্রভাবশালীদের নেতৃত্বে পাহাড় কাটার একটি সিন্ডিকেট চক্র স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে চলছে বিভিন্ন এলাকার ছোট বড় পাহাড় ও টিলা কাটা। অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, প্রতিদিন ভোর ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত অন্তত ১৫-২০টি ট্রলি গাড়িতে করে পাহাড়ের মাটি বিক্রি করছে সিন্ডিকেট চক্রটি। প্রায় ৪৫ ফুট ধারণকৃত প্রতি ট্রলি পাহাড়ি মাটি ৮০০-১০০০ টাকা হারে বিক্রি করে রাতারাতি কোটি টাকার মালিক বনে যাচ্ছে চক্রটি। চক্রটি এ পর্যন্ত ৪-৫টি ৬০-৭০ ফুট উঁচু পাহাড় কেটে সাবাড় করেছে। পাহাড় কেটে সমতল করে ফেলে। এতে পাহাড়ের বিভিন্ন স্থানে ফাটল সৃষ্টি হওয়ায় প্রবল বর্ষনে পাহাড় গুলো ধসে যে কোন মুর্হুতে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। কাঞ্চন নগর  এলাকার  বসবাসরত কয়েক জন প্রবীন ব্যক্তি নাম প্রকাশ না করা শর্তে বলেন, এক সময় কাাঞন  নগর চা বাগান এলাকায় পাহাড়ের অন্যতম সৌন্দর্য ছিল হরিণ, বাঘ, ভালুকসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী। অনেকেই এ পাহাড় বেষ্টিত এলাকাটিকে বনভোজনের উপযুক্ত স্থান হিসেবে ব্যবহার করত। কিন্তু অবৈধভাবে পাহাড় কাটার ফলে ওই এলাকার পরিবেশ হারাচ্ছে তার প্রাকৃতিক ভারসাম্য। এছাড়া পাহাড় উজাড় হওয়া কারণে পাহাড়ে বসবাসরত প্রাণীকূল হারাচ্ছে তাদের নিরাপদ আবাসস্থল। এতে করে পাহাড়ের অন্যতম সৌন্দর্য বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণীগুলোকে এখন আর দেখা যায় না বলে স্পটটি হারাতে বসেছে তার অতীত ঐতিহ্য। বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, কাঞ্চন নগর চা বাগান পাহাড়  কেটে সমতল করে দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলার লোকজনের কাছে সরকারি এই পাহাড় বিক্রি করে টাকার হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। পাহাড়।কেটে সমতল করে প্লট বিক্রি করে আরেকটি প্রভাবশালী চক্র রাতারাতি কোটিপতি বনে গেছে বলে জনশ্রুতি রয়েছে।এসব এলাকার পাহাড়ি এলাকায় প্রকাশ্যে চলছে এই পাহাড় কাটার উৎসব। পাহাড়ের মাঠি দিয়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ভরাট করা হচ্ছে ছোট বড় পুকুর ও জলাশয়। পরিবেশ অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তপক্ষের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পাহাড় কর্তনের কোন অভিযোগ আমরা এখনও পাইনি। অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে

 কাঞ্চন নগর চা বাগানের  লড শ্রীমাই  পাহাড় কাটার দৃশ্যমান শহিদুল ইসলাম এরশাদ মিয়া, রিদওয়ান মাহমুদ কফিল সিন্ডিকেট গঠন করে পাহাড় কেটে সাবাড় করছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কতৃপক্ষ তদন্ত সাপেক্ষ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া দাবি জানান স্থানীয়রা।
স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ লোক মান ও দিদারুল আলম জানান, এ-সব পাহাড় কেটে সাবাড় করছে 
পটিয়ার কাঞ্চন নগর  চা বাগানের জায়গা ও লড শ্রীমাই রাতের আধারে পাহাড় কেটে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে কিছু অসাধু ভূমিদস্যু ব্যবসায়ীরা তাদের নাম হচ্ছে  শহিদুল ইসলাম পিতা জাফর আহমদ প্রকাশ গুজা জাফর,  এরশাদ মিয়া পিতা খাইর আহমদ মৃত,  রিদওয়ান মাহমুদ কফিল পিতা আব্দুল খালেক গ্রাম উত্তর কাঞ্চননগর চন্দনাইশের তাদের ভয়ে এলাকার লোকজন মুখ খোলার সাহস পাচ্ছে না। তাদের বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে সব অপরাধ কর্মকান্ড হয় বলে জানান। বিষয়টি জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরী ও ছন্দনাইশ আসনের এমপি আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরীর সুদৃষ্টি কামনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।

ঝিকরগাছা থানা পুলিশের চিরুনি অভিযানে ৯আসামীকে আদালতে প্রেরণ

ঝিকরগাছা থানা পুলিশের চিরুনি অভিযানে ৯আসামীকে আদালতে প্রেরণ

আফজাল হোসে চাঁদ : ঝিকরগাছা থানা পুলিশের চিরুনি অভিযানে বিভিন্ন মামলার সাথে সংযুক্ত ৯আসামীকে করে আদালতে প্রেরণ করেছে বলে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক সংবাদকর্মীদেরকে জানিয়েছেন।
থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক জানান, যশোর জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব প্রলয় কুমার জোয়ারদার, বিপিএম (বার), পিপিএম মহোদয়ের দিক নির্দেশনায় ও আমার তত্বাবধনে থানা পুলিশের অফিসার ও ফোর্সগণ রাত্রকালীন বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। এরপর থানা এলাকার বিভিন্ন জায়গা হতে ০২ জন ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী ও ০২ জন পুরাতন (গণধর্ষণ) মামলার আসামীসহ সর্বমোট ৯জন আসামীকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার দুপুরে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
উক্ত আসামীরা হল- সিআর মামলার আসামী ঝিকরগাছা থানার উজ্জলপুর গ্রামের মোঃ আঃ রাজ্জাক সর্দারের ছেলে মোঃ রাসেল হোসেন, সিআর-৩০৯/১৯ মামলার আসামী গৌরসুটি গ্রামের মৃত মজিদ বিশ্বাসের ছেলে আব্দুস সাত্তার, থানার পুলিশের চলতি ১৬নং মামলায় ৩৪পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট সহ গোয়ালহাটি স্কুলপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল মিয়ার ছেলে মোঃ জামাল উদ্দিন, থানার পুলিশের চলতি ১৫নং মামলায় র‌্যাব-৬ এর অভিযানে ২কেজি গাঁজা সহ বোনাপোল পোর্ট থানার বোয়ালিয়া মাইনকা গ্রামের মৃত নেছার আলী মোড়লের ছেলে মশিয়ার রহমান, থানার পুলিশের চলতি ১৪নং মামলায় ৩০পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট সহ শার্শা থানার বুরুজবাগান গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে আবু সাঈদ ও ঝিকরগাছা থানার মাটিকুমরা গ্রামের মৃত দাউদ গাজীর ছেলে জিয়াউর রহমান, থানার পুলিশের চলতি ১৩নং মামলায় ৫শ গ্রাম সহ গুননগর গ্রামের এলাহী বক্স মোড়লের ছেলে ইসার আলী, থানার পুলিশের চলতি ০৯ (১০) ২০২০নং নাঃ শিঃ ৯(৪) (১) ধারার মামলায় দোস্তপুর গ্রামের শতকত আলীর ছেলে মোঃ সোহান এবং মৃত মোশারেফ হোসেনের ছেলে মোঃ সাদ্দাম হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামীদেরকে বিচারের নিমিত্তে পুলিশ প্রহরায় বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

নবীনগর নাটঘর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে নির্বাচনী পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত

নবীনগর নাটঘর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে নির্বাচনী পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত

এস.এম অলিউল্লাহ  নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন কে সামনে রেখে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলা নাটঘর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে নির্বাচনী পরামর্শ সভা রবিবার বিকেলে নাটঘর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এসময় নাটঘর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি হাবিবুর রহমান এরশাদ এর সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুবলীগের কার্যকরী সদস্য সাহজাহান মাহাজন এর সঞ্চালণায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান শাহিন সরকার,সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক প্রণয় কুমার ভদ্র পিন্টু,শিবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল  ইসলাম আকছির,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ওয়ারেছ সর্দার,প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জরু মিয়া সর্দার,ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান,সাংগাঠনিক সম্পাদক গোলাম মাওলা টিপু,আওয়ামীলীগ নেতা খসরু ঠিকাদার,আমিনুল ইসলাম বাবু,ছাত্রলীগের আহবায়ক মহি উদ্দিন লিমন,ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমান সুমন সহ ওয়ার্ড আওয়ামিলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগন।

পরামর্শ সভায় নাটঘর ইউনিয়ন অাওয়ামীলীগ থেকে ৬ প্রার্থী বাছায় করেছে,তারা হলেন নাটঘর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম অালম,জেলা কৃষকলীগের উপদেষ্ঠা রতন,ইউনিয়ন অাওয়ামীলীগের আহবায়ক নোয়াব মোল্লা,আওয়ামীলীগ নেতা শামিম আব্দুল্লা,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আব্দুল জলিল,সহ সভাপতি আইনুল কবির মিন্টু।

বক্তারা তাদের বক্তব্যে বলেন আমাদের এই ৬ জন প্রার্থীর মধ্যে দল যাকে নমিনেশন দিবে আমরা তাকে নিয়েই  কাজ করবো।পূর্বের ন্যায় এবার ও যদি হাইব্রিড আওয়ামীলীগ কে প্রার্থী দেওয়া হয় আমরা সেটা মেনে নিব না।

জয়পুরহাটে ক্রীড়া সংশ্লিষ্টরা পেলেন প্রধানমন্ত্রীর অনুদান

জয়পুরহাটে ক্রীড়া সংশ্লিষ্টরা পেলেন প্রধানমন্ত্রীর অনুদান

জামিরুল ইসলাম জয়পুুরহাট জেলা প্রতিনিধি: জয়পুরহাটে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত খেলোয়ার, প্রশিক্ষক, ক্রীড়া সংগঠক, ক্রীড়া সংশ্লিষ্টদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার সকালে জয়পুরহাট স্টেডিয়ামের সভাকক্ষে এই চেক বিতরণ করা হয়।

জেলার ফুটবলার, ক্রিকেটার অ্যাথলেটিক, ব্যাডমিন্টনসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরির ৪৫ জন খেলোয়াড় সাত হাজার টাকার এ চেক পেয়েছেন।

জয়পুরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহসভাপতি মুনিরুজ্জামানের সভাপতিত্বে চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান রকেট, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, জয়পুরহাট রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম হক্কানি, জেলা ক্রিড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহবুব মোরশেদুল আলম লেবু, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক খ.ম আব্দুর রহমান রনি প্রমুখ।

সীমানা জটিলতায় যশোর পৌর নির্বাচন স্থগিত

সীমানা জটিলতায় যশোর পৌর নির্বাচন স্থগিত

নিউজ ডেস্কঃ আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া যশোর পৌরসভা নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার হাইকোর্টে একটি রিট শুনানি শেষে নির্বাচনের উপর স্থগিতাদেশ দেয়া হয়। সীমানা বৃদ্ধি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে নির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিটটি করা হয়েছিলো।

যশোর পৌরসভার নির্বাচনী তফসিল অনুযায়ী গত ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ছিল মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। গত ৪ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করে বৈধ প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। যাচাই-বাছাইয়ে বিএনপির মেয়র প্রার্থী সাবেক মেয়র মারুফুল ইসলাম মারুফের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে যায়। ১১ ফেব্রুয়ারি প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন শেষে ১২ ফেব্রুয়ারি প্রতীক বরাদ্দের দিন নির্ধারিত ছিল।

মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার সময় ৪ জন আটক

মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার সময় ৪ জন আটক

সম্রাট হোসেন ঝিনাইদহ প্রতিনিধি :ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশ থেকে অবৈধ ভাবে ভারতে যাওয়া সময় ৪ জনকে আটক করেছে বিজিবি। 
মঙ্গলবার সকালে উপজেলার যাদবপুর সীমান্তের বেতবাড়িয়া নামক স্থান থেকে তাদের আটক করা হয়। দুপুর ২ টার দিকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানায় বিজিবি। এদের মধ্যে একজন পুরুষ, একজন নারী ও দুইজন শিশু রয়েছে। 
ঝিনাইদহ বিজিবি-৫৮ ব্যাটালিয়ানের পরিচালক লে. কর্ণেল কামরুল আহসান জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে পাসপোর্ট অধ্যাদেশ আইনে মামলা করে মহেশপুর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। সীমান্ত এলাকায় এ ধরনের অবৈধ অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সব সময় সতর্ক রয়েছে বিজিবি।
উল্লেখ্য, চলতি বছরের জানুয়ারী থেকে এখন পর্যন্ত সীমান্ত এলাকা দিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টার সময় ৮৯ জনকে এবং সহায়তাকারী ৩ দালালকে আটক করা হয়েছে।

ঝিনাইদহে এশিয়া মহাদেশের প্রাচীন বট গাছটি ধ্বংসের পথে

ঝিনাইদহে এশিয়া মহাদেশের প্রাচীন বট গাছটি ধ্বংসের পথে


সম্রাট হোসেন , ঝিনাইদহ :ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার মল্লিকপুর গ্রামে অবস্থিত এশিয়ার সর্ববৃহৎ বটগাছ। প্রায় ৪০০ বছরের পুরোনো এই বটগাছ নষ্ট হতে বসেছে যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে।

২০০৯ সাল থেকে যশোর সামাজিক বন বিভাগ রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নিলেও জমি অধিগ্রহণসহ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কোন অগ্রগতি নেই। গাছটির চারপাশে চলাচলের রাস্তার হওয়ার কারণে দিন দিন মারা যাচ্ছে গাছটি। এ অবস্থায় এলাকার প্রাচীন ঐতিহ্য ধরে রাখতে ও গাছটিকে ঘিরে পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তুলতে সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঝিনাইদহ শহর থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দক্ষিণে কালীগঞ্জ উপজেলার বেথুলী গ্রামের মৌজায় জন্মালেও এটা সুইতলা মল্লিকপুরের বটগাছ হিসেবে পরিচিত। প্রায় পাঁচ একর জমির ওপর বেড়ে উঠা এ বৃক্ষের ডালপালা বয়সের ভারে মাটিতে নুয়ে পড়েছে।

স্থানীয় বয়োবৃদ্ধদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বেথুলী গ্রামের একটি কুয়ার পাশে জন্মায় গাছটি। তবে এটি রোপণ করা হয়েছিল নাকি এমনিতেই জন্মেছে তার সঠিক ইতিহাস খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে এলাকাবাসীর ধারণা আজ থেকে প্রায় ৪০০ বছর আগে কোন উড়ন্ত পাখির মুখ থেকে পতিত ফলেই জন্ম হতে পারে এ বৃক্ষের।

বনবিভাগ থেকে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, অতীতে বেশি জায়গা জুড়ে বৃক্ষটি বিস্তৃত থাকলেও এখন আছে ২.০৮ একর জুড়ে। এ বৃক্ষের মোট ৩৪৫টি বায়বীয় মূল রয়েছে। যে মূলগুলো মাটির গভীরে প্রবেশ করেছে। আর ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে ৩৮টি মূল। বটগাছটি দেখার জন্য প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ ভীড় জমায় ঐতিহ্যবাহী এ বৃক্ষটির তলে। প্রকৃতি প্রেমিক দর্শনার্থীরা শহরের কোলাহলপূর্ণ পরিবেশ থেকে এ অজ পাড়াগায়ের এ বৃক্ষের তলে এসে কোকিল, ঘুঘু, টিয়া, শালিকসহ নানা প্রজাতির পাখির কিচিরমিচির শব্দে কিছু সময়ের জন্য হলেও নিজেকে প্রকৃতির মধ্যে হারিয়ে ফেলেন।

তবে বটবৃক্ষটি সঠিক রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে নষ্ট হতে বসেছে। বৃক্ষটিকে তিন দিকে লোক চলাচলের রাস্তা থাকায় বেড়ে উঠতে পারছে না আপন গতিতে।

স্থানীয় রাড়িপাড়া গ্রামের এম এ জলিল জানান, বিভিন্ন সময়ে অনেকে সরকারি ভাবে বটগাছের উন্নয়নের কথা শুনিয়েছেন কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। জেলা পরিষদের তত্ত্বাবধানে দূর থেকে আসা দর্শণার্থীদের কল্যাণে ১৯৮৫ সালে নির্মিত রেস্ট হাউজও আজ ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে। পরে নতুন একটি রেষ্ট হাউজ নির্মিত হয়েছে কিন্তু দেখ ভালে নিয়োজিত ব্যক্তি অধিকাংশ সময় থাকেন না। এলাকার মানুষের নজরদারিতে দীর্ঘদিন ধরে গাছটি বেঁচে আছে। সরকারি ভাবে যতটুকু করা হয়েছে তা প্রয়োজনের তুলনায় যথেষ্ট নয়। একটি পুর্ণাঙ্গ পিকনিক স্পট করতে পারলে এলাকার শ্রীবৃদ্ধি ঘটবে। রক্ষা পাবে এলাকার ও দেশের একটি দর্শনীয় স্থান।

স্থানীয় মোশারফ হোসেন মাস্টার জানান, ছোট বেলা থেকে দেখে আসছি মল্লিকপুর ও বেথুলী পাশাপাশি গ্রাম দুটির মানুষের মধ্যে বটগাছ। এটা আমাদের সকলের সম্পদ। সব মানুষের কথা বটবৃক্ষটির রক্ষণাবেক্ষণ দরকার। বর্তমান রেস্ট হাউজটি সাধারণ দর্শনার্থীদের কোন কল্যাণে আসে না। বৃক্ষটির ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য বন বিভাগ সরকারের উচ্চ মহলে ধরণা দিয়েছেন কিন্তু তেমন কোন লাভ হয়নি।

ঝিনাইদহ জেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা খোন্দকার মো. গিয়াস উদ্দীন জানান, আগে সরকারি ভাবে খাস জমিতে ছিল। পরর্বতীতে বন বিভাগ দেখলো এশিয়ার সেরা বটগাছ রক্ষণাবেক্ষণ করার দরকার ছিল অনেক আগে থেকেই। পরে জেলা প্রশাসন থেকে বন বিভাগের তত্ত্বাবধানে নিয়েছে। ইতোমধ্যে সেখানে উন্নয়নমূলক কিছু কাজ করা হয়েছে। দেখাশোনার জন্য আমাদের লোক আছে। বন বিভাগের পক্ষ থেকে একটি ব্রাক হাউজ নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া ওই স্থানটি আরও ভালো করার জন্য বন বিভাগ একটি প্রকল্প উপরে পাঠিয়েছে। প্রকল্পটি যদি বাস্তবায়ন হয় তাহলে একটা পর্যটন কেন্দ্রসহ একটি পুর্ণাঙ্গ পিকনিক স্পট হতে পারে।

শৈলকুপায় ৫ বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগে বৃদ্ধ গ্রেফতার

শৈলকুপায় ৫ বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগে বৃদ্ধ গ্রেফতার

সম্রাট হোসেন  ,ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহের শৈলকুপায় উপজেলার বাহির রয়েড়া গ্রামে ৫ বছরের এক কণ্যাশিশুকে ধর্ষনের অভিযোগে তরিকুল জোয়ার্দ্দার (৫০) নামের এক বৃদ্ধকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
মঙ্গলবার সকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
শৈলকুপা থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, অভিযুক্ত তরিকুল জোয়ার্দ্দারের সাথে নির্যাতিতা শিশুটির বাবার বন্ধুত্বপুর্ণ সম্পর্ক ছিল। রোববার বিকেলে তরিকুল ওই বাড়িতে যায়। সেখানে কাউকে না পেয়ে ঘরের মধ্যে শিশুটিকে ধর্ষন করে। শিশুটির চিৎকারে তার মা এগিয়ে এলে তরিকুল পালিয়ে যায়। পরে তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এ ঘটনায় সোমবার রাতে শৈলকুপা থানায় শিশুটির চাচা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরের পর অভিযান চালিয়ে পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গণসংযোগে ব্যস্ত নুর মোহাম্মদ

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গণসংযোগে ব্যস্ত নুর মোহাম্মদ

স্টাফ রিপোর্টার: ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন নুর মোহাম্মদ । জানা যায় যশোর জেলার  ঝিকরগাছা উপজেলার ১ নং গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভোটারের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন অত্র ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নং ওর্য়াডের মেম্বর পদপ্রার্থী নুর মোহাম্মদ  ।প্রতিনিয়ত ছুটে চলেছেন সাধারণ ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ।ব্যাস্ত সময় পার করছেন এই জনদরদি নেতা ,তারই ধারাবাহিকতায় গত (২২ জানুয়ারি )  সন্ধ্যায় অত্র ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের  কাগমারী  গ্রামে গণসংযোগ ও মতবিনিময় করেছেন আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মেম্বর  পদপ্রার্থী গরিব, দুঃখীর বন্ধু জনপ্রিয় এই নেতা। অত্র  মতবিনিময় সভায় তিনি ইউনিয়ন পরিষদ   নির্বাচনে  মেম্বর পদপ্রার্থী হিসেবে সকলের কাছে তার জন্য দোয়া ও সমর্থন চান। এই মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন অত্র ইউনিয়ন এর উপস্থিত ছিলেন গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়ন পূজা উজ্জাপন কমিটির সেক্রেটারি শ্রীবাস দাস।
সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন 
রবি,সঞ্জয়, সুনিল মিস্ত্রি সহ সর্বস্তরের নেতাকর্মী ও সাধারন ভোটার। 

সিরাজগঞ্জে পুকুরের পাড় থেকে আরিফ নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার!

সিরাজগঞ্জে পুকুরের পাড় থেকে আরিফ নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার!

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ,জেলাপ্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জ শহরের হৈমবালা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পুকুর থেকে আরিফ (১৬) নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুর দেড়টার দিকে শহরের হৈমবালা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশের পুকুরের পাড়ে বিদ্যুতের তার পেছানো অবস্থায় ওই যুবকের মরদেহ উদ্বার করা হয়।মৃত আরিফ পৌর এলাকার রেলওয়ে কলোনী মধ্যপাড়ার হাসেমের ছেলে।
সিরাজগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, দুপুরে স্থানীয়রা লাশটি দেখে থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেখ ফজিলাতুন্নেচ্ছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
তিনি আরও জানান, নিহতের দুই হাত বিদ্যুৎ তারের সাথে পেছানো ছিলো। পুলিশের ধারণা, গত রাতে কোনও এক সময়ে ঐ স্থানে বিদ্যুৎ তারের সাথে জড়িয়ে পড়ে মারা যায়।

অটো রিক্সার যন্ত্রনায় রাস্তাঘাটের দুরাবস্তা

অটো রিক্সার যন্ত্রনায় রাস্তাঘাটের দুরাবস্তা

আলমগীর হোসেন, বাঙ্গরা বাজার থানা প্রতিনিধিঃ কুমিল্লা উত্তর জেলাধীন মুরাগনগর উপজেলার নবগঠিত বাঙ্গরা বাজার থানার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের শশুর বাড়ি সংলগ্ন প্রবেশ পথের প্রধান গেট এর সামসের স্টিলের ব্রিজে আজ সকাল 10 ঘটিকায় ঘটে এমন অপ্রিতিকর ঘটনা।

দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজ পোর্টালের  বাঙ্গরাবাজার প্রতিনিধিএবং আকুব ইউনিয়নের পান্ডুঘর গ্রামের পান্ডুঘর সামসুদ্দিন আহাম্মদ ভূঁইয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের আলমগীর হোসেন সহকারি শিক্ষক (আইসিটি) ও মো মনিরুল ইসলাম সহকারী শিক্ষক (ইংরেজী) আজ সকালে স্কুলে যাওয়ার পথে এমন ন্যাক্কার জনক ঘটনার কবলে পরে। এবং এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে যানজট তৈরীতে এই ধরনের গাড়ি ও গাড়ির চালকদের দায়ী করে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করে।

লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্সের ব্লেডের পোচে নার্সের হাতে ৫ সেলাই

লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্সের ব্লেডের পোচে নার্সের হাতে ৫ সেলাই

মো: আজিজুর বিশ্বাস,স্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃ লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জুনিয়ার নার্সের হাতের  ব্লেডের পোচে সিনিয়র নার্সের হাতে পারে গত ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ তারিখ:শনিবার দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের সময় লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩ জন নার্স ডিউটিরত ছিলেন,আর তাহারা হলেন নার্স রেহানা পারভীন, নার্স রিপা বিশ্বাস, ও নার্স স্বপ্না লস্কর। এর মধ্যে রিপা বিশ্বাস ও স্বপ্না লস্কর ২ জন ডিউটি চলাকালীন সময় ৩ তলায় কম্পিউটার রুমের ওয়াশরুমে ভ্রু ফ্লাগ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন, ইতি মধ্যে সিনিয়র নার্স রেহানা পারভীন ওয়ার্ডের রুগীদের সেবাদানের পর হাত ধৌত করার জন্য ওয়াশরুমে যাওয়ার সময় নার্স রিপা বিশ্বাসের হাতে থাকা ধারালো ব্লেডের পোচে নার্স রেহানা পারভীন এর ডান হাতের কব্জির উপরে পোচ লেগে কেটে যায়।

 এবং রেহেনা পারভীর এর হাতে ৫ টি সেলাই দেওয়া হয়। এরপর তাকে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছব্দ নামে ভর্তি করা হয়। এবং সে নামটি হল লাভলী।যাহাতে মানুষ বুঝতে না পারে, তাকে সাধারণ রোগীদের মত ছদ্ম নামে ভর্তি করে  আত্ম গোপনে কোয়ার্টারে রেখে চিকিৎসা দিচ্ছেন বলে জানা যায়। 

আহত রেহেনা পারভীন বলেন সামনে আমার এম,পি,এইচ পরীক্ষা আমি এই কাটা হাত নিয়ে কিভাবে পরীক্ষা দিব এসময় রেহেনা পারভীন আরো বলেন আমি সংসারে একা ইনকাম করি স্বামী সন্তান নিয়ে অসুস্থ অবস্থায় চরম বিপদে আছি, যারা আমার হাতে পোচ দিলো একটি বার তারা আমাকে দেখতে আসলো না, আমি কি তাদের শত্রু, 

রেহেনা পারভীন আরো জানান, লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএসও শরীফ সাহাবুর রহমান,অামাকে ও ,নার্স স্বপ্না লস্কর,ও নার্স রিপা বিশ্বাস, সহ আরো অনেকের উপস্থিতিতে মিষ্টি মুখ করিয়ে ঘটনটি মিমাংসা করার চেষ্টা করেন।

আহত রেহেনার বড় ভাই জিল্লুর রহমান বলেন।টি এস ও সাহেব আমার বোনের বিচার কি মিষ্টি মুখ করিয়ে শেষ করলেন এ কেমন বিচার হলো।উক্ত বিষয় নিয়ে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টি,এসও শরীফ সাহাবুর রহমানের সাথে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন যে নার্স রিপা বিশ্বাস,ও নার্স স্বপ্না লস্কর,ডিউটি টাইমে ভ্রু ফ্লাগ করেছিল সত্য। তবে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে অসতর্কতার কারণে। 

নোবিপ্রবি'র ইএসডিএম বিভাগে 'জিআইএস ল্যাব' উদ্বোধন

নোবিপ্রবি'র ইএসডিএম বিভাগে 'জিআইএস ল্যাব' উদ্বোধন

নোবিপ্রবি  প্রতিনিধিঃ নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স এন্ড ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট (ইএসডিএম) বিভাগের  'জিআইএস ল্যাব' উদ্বোধন করা হয়েছে। 

আজ মঙ্গলবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে ইএসডিএম বিভাগে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এর উদ্বোধন করেন  উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ দিদার-উল-আলম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নোবিপ্রবি কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর। এতে সভাপতিত্ব করেন এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স এন্ড ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট (ইএসডিএম) বিভাগের  চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মহিনুজ্জামান। এছাড়া অনুষ্ঠানে বিভাগের অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, উদ্বোধন শেষে উপাচার্য ইএসডিএম বিভাগের ল্যাব পরিদর্শন করেন।

শামসুল উলামা আল্লামা ফুলতলী রহ: ও এলাকার ওলি আউলিয়াদের ইসালে সাওয়াব মাহফিল সম্পন্ন

শামসুল উলামা আল্লামা ফুলতলী রহ: ও এলাকার ওলি  আউলিয়াদের ইসালে  সাওয়াব মাহফিল সম্পন্ন

আব্দুল হালিম,বিশ্বনাথ(সিলেট)প্রতিনিধি: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার লামাকাজীতে শামসুল উলামা আল্লামা ফুলতলী রহ: সৎপুরী ছাব, ফতেহপুরী ছাব, কাজীবাড়ী ছাব, উকিল আলী (বড় হুজুর) ছাব, হামজাপুরী ছাব, আকিলপুরী ছাব, হাউসা ছাব, দূর্লভপুরী হুজুর, আকরম খান (খাসাব হুজুর), রাঘবপুরী ছাব, প্রমুখ আউলিয়ায়ে কেরামসহ মুর্দেগানদের ইসালে সাওয়াব মাহফিল অনুষ্টিত হয়েছে।

সোমবার ৮ ফেব্রুয়ারি বাদ জোহর (থেকে শুরু হয়ে মধ্যরাত পর্যন্ত) স্হানীয় উপজেলার লামাকাজী আল নূর কমিউনিটি সেন্টারে এ মাহফিল অনুস্টিত হয়।
ইসালে সাওয়াব মাহফিলে প্রধান অতিথির নসিহত পেশ করেন সিলেটের সোবহানীঘাটস্হ হযরত শাহজালাল দারুস সুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ আল্লামা কমর উদ্দিন চৌধুরী।
ইসালে সাওয়াব মাহফিল বাস্তবায়ন পরিষদের সভাপতি ও বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য আপ্তাব উদ্দিন মাস্টার এর সভাপতিত্বে পরিষদের সাধারন সম্পাদক মাওলানা আমিরুল ইসলাম এর পরিচালনায় বিশেষ অতিথির নসিহত পেশ করেন সৎপুর দারুল হাদিস কামিল মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা ছালিক আহমদ, মাওলানা মর্তুজ আলী আমানতপুরী, মুফতি ফজলুর রহমান কিশোরগন্জী, সৎপুর কামিল মাদরাসার মুহাদ্দিস মাওলানা সালেহ আহমদ বেতকুনী, বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ লামাকাজী ইউনিয়ন শাখার সভাপতি মাওলানা হরমুজ আলী, পরগনা বাজার জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা মনোহর খান, মির্জার গাঁও গ্রামের মাওলানা রাজিকুল ইসলামসহ প্রমুখ।
পরিশেষে করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তির জন্য দেশ ও জাতীর জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়।।

বীরগঞ্জের ১১টি ইউনিয়নে চলছে স্মার্ট এনআইডি বিতরণ

বীরগঞ্জের ১১টি ইউনিয়নে চলছে স্মার্ট এনআইডি বিতরণ

খাদেমুল ইসলাম রাজ, বীরগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধিঃদিনাজপুর  জেলার বীরগঞ্জ  উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্ট এনআইডি) প্রদান করা হচ্ছে । গত ৭ই ফেব্রুয়ারি মার্চ থেকে স্মার্ট এনআইডি প্রদান করা শুরু হয় চলবে ১৪ মার্চ পর্যন্ত।

পলাশবাড়ী ইউনিয়ন  কেন্দ্র থেকে স্মার্ট এনআইডি কার্ড প্রদান করা শুরু হয় আজ ৯ই  ফেব্রুয়ারি সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। 

ইসির তথ্য অনুযায়ী, স্মার্ট এনআইডি সংগ্রহ করতে হলে প্রত্যেক ব্যক্তির কাছে সংরক্ষিত জাতীয় পরিচয়পত্র সঙ্গে আনতে হবে এবং লেমিনেটেড এনআইডি কার্ড জমা দিতে হবে। কেন্দ্রে ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবি নেয়া হবে। যার কার্ড তিনি ছাড়া অন্য কেউ এলে হবে না। প্রত্যেক ভোটার এলাকায় ভিন্ন ভিন্ন তারিখে স্মার্ট এনআইডি দেয়া হচ্ছে। যাদের লেমিনেটেড এনআইডি হারিয়ে গেছে, তারা সংশ্লিষ্ট থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে আবেদন করে এনআইডি উঠিয়ে বিরতণ কেন্দ্রে যেতে হবে।

পটিয়া পৌরবাসীর মঙ্গলের জন্য লাঙ্গল মার্কায় শামশু মাষ্টার'কে ভোট দিন- সেন্টু

পটিয়া পৌরবাসীর মঙ্গলের জন্য লাঙ্গল মার্কায় শামশু মাষ্টার'কে ভোট দিন- সেন্টু

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ- জাতীয় পার্টি প্রেসিডিয়াম সদস্য শফিকুল ইসলাম  সেন্টু বলেছেন পটিয়া পৌরবাসীর উন্নয়ন ও মঙ্গলের জন্য লাঙ্গল মার্কায় শামশুল আলম মাস্টার'কে ১৪ ফেব্রুয়ারী নির্বাচনে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার আহবান জানিয়েছেন।তিনি বলেন, শামশুল আলম মাস্টার একজন ভালো লোক তিনি নির্বাচিত হলে অতীতের ন্যায় উন্নয়ন দারা অব্যাহত থাকবে। নির্বাচনে বহিরাগত সন্রাসী যাতে ভোট কেন্দ্রে প্রভাব বিস্তার করতে না পারে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে সজাগ থাকার আহবান জানান।তিনি ৮ ফেব্রুয়ারী পটিয়া দলীয় কার্য়লয়ে নির্বাচনে পরিবেশ খোঁজ খবর নিতে এসে দলীয় নেতা কর্মীদের ফুলের শুভেচ্ছা জানাতে গেলে উপরোক্ত কথা বলেন। মেয়র প্রার্থী শামসুল আলম মাস্টার বলেন দল বড় কথা নয় জনগনের দল আমি পটিয়া জনগনকে ভালোবাসি তারাও আমাকে ভালো বাসে।জীবনের শেষ নির্বাচন লাঙ্গল মার্কার ভোট দিয়ে নির্বাচিত করলে হয়রানি মুক্ত নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা হবে তিনি সকলের সহযোগিতা দোয়া আশীর্বাদ কামনা করে লাঙ্গল মার্কায় ভোট দেওয়ার বিশেষ অনুরোধ জানান।এসময় বক্তব্য রাখেন, পটিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টি আহবায়ক বীর মুক্তি যোদ্ধা  রফিক চেয়ারম্যান, কমিশনার নুরুল ইসলাম,  কাজী খোরশেদ আলম, পৌর সহ সভাপতি সেলিম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমদ, মেয়র পুএ মাঈনুূদ্দীন মাঈনু,  নাজিম উদ্দীন মজুমদার,বদিউল আলম প্রবাসী, জাহাঙ্গীর আলম মেম্বার, ডাঃ খোরশেদ  আলম,  দিদারুল, দিলীফ  ঘোষ দিপু মেম্বার, ফয়জুল কবির চৌধুরী, হারুনর রশিদ, ইয়াকুব, কবির চৌধুরী, সাইফুর রহমান, নেজাাম সওঃ, ইকবাল মেম্বার, রমজান আলী, নুর হোসেন সওঃ,আবু ছিদ্দিক,  রবিউল হাসান, রাজু,  মনির চেয়ারম্যান, বিকাশ মিএ, রুপেশ সরকার, রতন শীল, নেজাম সওঃ নুরু সওঃ জসিম উদ্দিন বাবর,ফজলুল, মিজান,নজরুল প্রমুখ।

সিরাজগঞ্জে স্কুল শিক্ষাকার মরদেহর স্বর্ণ চুরি,আটক ৩ ডোম

সিরাজগঞ্জে স্কুল শিক্ষাকার মরদেহর   স্বর্ণ চুরি,আটক ৩ ডোম

মাসুদ রারা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার মিরপুর মহল্লার কালাচাঁন মোড়ে বাস ও ট্রাকের মাঝখানে চাপা পড়ে বনবাড়ীয়া সরকরি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা ও পৌর এলাকার মিরপুর দক্ষিণপাড়া মহল্লার মৃত ইসাহাক তালুকদার ও মৃত ফরিদা খানমের মেয়ে এবং ঢাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাসুদ রহমান স্ত্রী ইফরাত সুলতানা রুনী (৩৮), তার ছেলে মাশবুবুর রহমান ওয়াদী (১২) ও মেয়ে সোয়াবা রহমান (৬) নিহত হয়।
ঘটনাস্থল থেকে সিরাজগঞ্জ সদর থানা পুলিশ নিহত শিক্ষিকা ও ছেলের লাশ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেখ ফজিলাতুন্নেচ্ছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়।
জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট বরাবর পারিবার থেকে ময়নাতদন্ত না করার পরিপ্রেক্ষিতে আবেদন করে নিহত লাশ ও ছেলেকে দাফনকার্য্য সম্পন্ন করার জন্য রবিবার সন্ধ্যায় মর্গে থেকে লাশ বাসায় নিয়ে যায়।
পরিবার সূত্রের অভিযোগের আলোকে নিহত শিক্ষিকার সঙ্গে স্বর্ণ একটি গলার চেইন, দুইটি অ্যাংটি, দুইটি হাতের বালা, একজোড়া কানের দুল ও নাকফুল ছিল।
মর্গে থেকে লাশ পাওয়ার পর শিক্ষিকার সঙ্গে থাকা স্বর্ণালঙ্কার পায়নি মর্মে সিরাজগঞ্জ সদর থানাকে অবগত করেন। পুলিশ সোমবার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেখ ফজিলাতুন্নেচ্ছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের ডোমে রানা, শাহ আলম, সুমনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদে স্বর্ণ একটি গলার চেইন, দুইটি অ্যাংটি, দুইটি হাতের বালা, একজোড়া কানের দুল ও নাকফুল উদ্ধার করেন।
এবিষয়ে সিরাজগঞ্জ সদর থানা অফিসার ইনচার্জ বাহাউদ্দিন ফারুকী বলেন, ৩জন ডোমকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদে নিহত শিক্ষিকার স্বর্ণলঙ্কার উদ্ধার করেছি। পরিবারের নিকট হস্তান্তর করব।
এবিষয়ে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেখ ফজিলাতুন্নেচ্ছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ফরিদুল ইসলাম বলেন, এবিষয়ে আমি অবগত নয়। যদি এই ধরনের ঘটনা ঘটে অবশ্যই ডোমের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।
উল্লেখ্য, রবিবার (৭ ফেব্র"য়ারী) স্কুল শিক্ষিকা রুনী তার ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে ব্যাটারিচালিত রিকশাযোগে শহরে যাচ্ছিলেন।
তারা কালাচাঁন মোড় এলাকায় পৌঁছালে এনায়েতপুর দরবার শরীফ থেকে সিরাজগঞ্জগামী জাহাঙ্গীর পরিবহনের একটি বাস সামনের একটি ট্রাককে ওভারটেক করতে গিয়ে রিকশাটিকে সজোরে চাঁপা দেয়। এতে রিকশাটি ট্রাকের পেছনে ধুমড়ে মুচড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই স্কুল শিক্ষিকার রুনী ও তার ছেলে নিহত হয়। এসময় গুরুতর আহত হয় রিকশাচালক চাঁন মিয়া ও শিশু সোয়াবা রহমান।
স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসক শিশু সোয়াবা রহমানকে মৃত ঘোষণা করে।

বিষখালী নদীর তীরে জেগে ওঠা ছৈলার চর: দিনদিন বাড়ছে পর্যটকের পদচারণা

বিষখালী নদীর তীরে জেগে ওঠা ছৈলার চর: দিনদিন বাড়ছে পর্যটকের পদচারণা

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার 
ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় সদর ইউনিয়নের বিষখালী নদীতে এক যুগেরও বেশি সময় ধরে ৭০ একর জমি নিয়ে নদীর বুকে জেগে উঠেছে এক বিশাল চর। "ছৈলা গাছ" এই চরের মূল আকর্ষণ। এখানে এলে দেখা মিলবে প্রায় লক্ষাধিক ছৈলা গাছের। এই গাছের নামেই মূলত নামকরণ হয়েছে চরটির।

তবে, ছৈলা ছাড়াও এখানে কেয়া, হোগল, রানা, এলি, মাদার, আরগুজিসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছে ঘেরা। দেখা মিলবে শালিক, ডাহুক আর বকের ঝাঁকের। গাছে গাছে রয়েছে মৌমাছির বাসা। শীতের তীব্রতা বাড়ার সাথে সাথে অভয়াশ্রম হিসেবে আশ্রয় নিতে আসা শুরু করে অতিথি পাখিও। ভ্রমণ পিপাসুদের প্রতিদিনের পদচারণায় এখন মুখরিত "ছৈলার চর"। নৈসর্গিক সৌন্দর্যের পসরা সাজিয়ে বসে আছে চরটি। এখানে পা রাখতেই কানে বাজবে শোঁ শোঁ শব্দ। মূলত বাতাসে ছৈলাপাতার নাচনে এমন শব্দ তৈরি হয়। মাঝেমধ্যে গর্জন করে নিজের অস্তিত্ব জানান দিচ্ছে নদীর ঢেউ। সেই গর্জনের সঙ্গে পাখির কলকাকলি মিশে অন্যরকম এক আবহ সৃষ্টি করছে।

উপকূলীয় জেলা ঝালকাঠির দক্ষিণ জনপদ কাঠালিয়ার বিষখালী নদীর তীরে প্রাকৃতিক ভাবে জেগে ওঠা চরটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি হিসেবে জনপ্রিয় হতে শুরু করেছে। প্রতিদিন হাজারো পর্যটক ভিড় করছেন এখানে। 'ছৈলার চর' পর্যটন খাতের ব্যাপক সম্ভাবনা থাকলেও রয়েছে নানা সংকট। প্রতিকূল যাতায়াত ব্যবস্থা ও পর্যাপ্ত নিরাপত্তার অভাবে পর্যটনের অপার সম্ভাবনাময় এ স্থানে পর্যটকরা চিন্তিত থাকেন। তবু সেই সংকট উপেক্ষা করেই প্রকৃতির নয়নাভিরাম এই ছৈলার চর পর্যটকদের মিলনমেলায় পরিণত হচ্ছে। জানুয়ারি-মার্চ মাসেই মূলত পর্যটকের ভীড় থাকে ছৈলার চরে। বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা সপরিবারে পিকনিকে আসে প্রকৃতির সাথে পরিচিত হতে। 

তবে, স্থানীয়দের অভিযোগ, পর্যটনের ব্যাপক সম্ভাবনা থাকলেও যোগাযোগ ব্যবস্থাসহ এখানে রয়েছে নানা সংকট। পৃষ্ঠপোষকতা পেলে দক্ষিণাঞ্চলের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে উঠবে এই চর বলেও আশাবাদী স্থানীয়রা। উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসন ছৈলারচর স্থানটি পর্যটন স্পট হিসেবে চি‎হ্নিত করেছেন, তবে বাস্তবায়ন হয়নি ছয় বছরেও।

নওগাঁর আত্রাইয়ে নবাগত ইউএনও"র সাথে সাংবাদিকদের মত বিনিময়

নওগাঁর আত্রাইয়ে নবাগত ইউএনও"র সাথে সাংবাদিকদের মত বিনিময়

মোঃ ফিরোজ হোসাইন, রাজশাহী ব্যুরোঃ নওগাঁর আত্রাই উপজেলার নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তা ইকতেখারুল ইসলাম উপজেলায় কর্মরত সকল সাংবাদিকের সাথে মত বিনিময় করেছেন।

সোমবার বিকাল ৫টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার প্রথমে প্রেসক্লাব সভাপতি রুহুল আমীন সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে তাকে বরণ করে নেন। সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে নবাগত ইউএনও সকল ধরনের সহযোগিতা কামনা করে, বলেন আত্রাই উপজেলাকে ডিজিটাল ও মডেল উপজেলা হিসাবে গড়ে তুলা হবে আমার একান্ত কাম্য।
সাংবাদিকদের পক্ষথেকে তাকে সকল ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করা হয়।

উক্ত মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক তপন সরকার,সাংবাদিক নাজমুল হক নাহিদ,সাংবাদিক এমরান মাহমুদ প্রত্যয়,সাংবাদিক আবু হেনা মোস্তফা কামাল, সাংবাদিক সোহেল আরমান,সাংবাদিক কামাল উদ্দিন টগর, উত্তাল মাহমুদ,সেন্টু রহমান,শারমিন শীলা প্রমূখ।

মৌলভীবাজার আদালতে রিকল জালিয়াতির অভিযোগ

মৌলভীবাজার আদালতে রিকল জালিয়াতির অভিযোগ

কুলাউড়া প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নের মেম্বার নোমান আহমদসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে আদালতের রিকল জালিয়াতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। জালিয়াতির ঘটনায় অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অভিযোগ (গত ০২ ফেব্রুয়ারি) দায়ের করেছেন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে। এ ঘটনায় আদালতপাড়াসহ কুলাউড়া উপজেলায় তোলপাড় চলছে। অভিযুক্ত ইউপি মেম্বার নোমান একজন আইনজীবি সহকারী।
উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত রহমান মিয়ার ছেলে সেফুল মিয়া একটি (জিআর ৩১১/৯৮ কুলা) মামলার ১ নম্বর আসামী। মামলায় অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড- প্রদান করেন। এই আসামী পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। গ্রেফতারি পরোয়ানাপ্রাপ্ত আসামীকে আটকে কুলাউড়া থানার এসআই পরিমল চন্দ্র সেফুল মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালান। অভিযানকালে তিনি জানতে পারেন সেফুল মিয়া আদালতের জামিনে আছেন। তিনি আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা রিকলমুলে আদালতে ফেরৎ প্রদান করেন। মামলার মুল নথি পর্য়ালোচনা করে দেখা যায়, পালাতক আসামী সেফুল মিয়া আদালতে আত্মসমর্পণ করেননি।
তাছাড়া রিকলে ৫নং আমলী আদালতের স্বাক্ষর ও সীল জালিয়াতি করা হয়েছে এবংআদালত থেকে কোন রিকল ইস্যু করা হয়নি বলে সংশ্লিষ্ট আদালতের বিচারক নিশ্চিত করেন। রিকলে অ্যাডভোকেট ক্লাক আকবর আলী জজ কোর্ট মৌলভীবাজার (কার্ড নং ৩৩) নামীয় কোন আইনজীবি নেই।
বিষয়টি আদালতের নির্দেশে কুলাউড়া থানার এসআই রফিকুল ইসলাম তদন্ত করে একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন। তদন্তকারী কর্মকর্তার তদন্তে সাজাপ্রাপ্ত আসামী সেফুল মিয়াকে রক্ষার উদ্দেশ্যে প্রতারণার মাধ্যমে আইনজীবি সহকারিও রাউৎগাঁও ইউপি মেম্বার নোমান আহমদ ও ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার পালবাড়ীর বাসিন্দা মৃত আবুল লেইছের ছেলে সুমন আহমদ মিলে এই জালিয়াতি করেছেন।
এই জালিয়াতির ঘটনায় আতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রট আদালতের বিচারক মো. বাহাউদ্দিন কাজী বাদি হয়ে ৩ জনকে অভিযুক্ত করে সরকারি কাজে বাঁধা সৃষ্টির অভিযোগে ০২ ফেব্রুয়ারি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৫নং আমল গ্রহণকারী আদালতে মামলা দায়ের করেন।
মামলা দায়েরের পর থেকে ইউপি মেম্বার নোমান আহমদসহ ৩ আসামী পলাতক রয়েছে। নোমান আহমদের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনটিও বন্ধ থাকায় কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
কুলাউড়া থানায় অফিসার্স ইনচার্জ ও মামলার এক নম্বর সাক্ষী বিনয় ভূষন রায় মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে করে জানান, আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্ঠা চলছে।

কুলাউড়ায় বন্ধুর বন্ধন রক্তদান ফাউন্ডেশন শ্রীপুর এর উদ্যোগে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও প্রবাসী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

কুলাউড়ায় বন্ধুর বন্ধন রক্তদান ফাউন্ডেশন শ্রীপুর এর উদ্যোগে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও প্রবাসী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃ কুলাউড়া উপজেলার ৫নং ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের  বন্ধুর বন্ধন রক্তদান ফাউন্ডেশন শ্রীপুর মাদ্রাসা বাজার এর উদ্যোগে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও প্রবাসী সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার অনুষ্ঠিত হয়। 

উক্ত অনুষ্ঠানে সংগঠনের সম্মানিত উপদেষ্টা জনাব সাইফুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক আবু সামাদ সুজেলের সাঞ্চলনায় প্রধান অতিথি ছিলেন, ৫ নং ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়ন এর সাবেক চেয়ারম্যান শ্রীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জনাব নুরুল ইসলাম খাঁন বাচ্চু। উপস্থিত ছিলেন, প্রবাসী সংবর্ধিত অতিথি যুক্তরাজ্য প্রবাসী  ময়নুল ইসলাম খান,দুবাই প্রবাসী মাসুম আহমদ, যুক্তরাজ্য প্রবাসী বাবু খান,  দুবাই প্রবাসী আব্দুল আলিম, আবুল বাসার ময়নুল, বন্ধুর বন্ধন রক্তদান ফাউন্ডেশন এর সভাপতি তরিকুজ্জামান তরিক  সিনিয়র সহ সভাপতি ইমরান আহমদ , সহ সভাপতি নাজমুল ইসলাম,  জামাল আহমদ, আমিনুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম লোমান, সহ সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মুকিত, সাইফুজ্জামান রাসেল মোতাসিম বিল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক তায়েফ আহমদ মাসুম, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক বাট্রু চন্দ্র দাস, টিপু চন্দ্র, প্রচার সম্পাদক রেজাউল  করিম মিটু, কোষাধ্যক্ষ আবেদ আহমদ, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক তাওহিদ খান, সহ ধর্মবিষয়ক সম্পাদক হাফিজ ইকবাল হোসেন প্রমুখ। রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করেন কুলাউড়া রক্তদান ফাউন্ডেশনের সদস্য আব্দুস সামাদ তানভীর,  সাদিয়া আক্তার এবং কুলাউড়া রিলায়েন্স এর ল্যাবটরিজ ফারাবি জুয়েল।