সৈয়দ আবুল মকসুদ আর নেই

সৈয়দ আবুল মকসুদ আর নেই

নিউজ ডেস্ক: খ্যাতিমান কলামিস্ট, গবেষক, সৈয়দ আবুল মকসুদ আর নেই। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। সৈয়দ আবুল মকসুদের ছেলে সৈয়দ নাসিফ মকসুদ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, বিকালে শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে তাকে স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। 

সৈয়দ আবুল মকসুদ ১৯৪৬ সালের ২৩শে অক্টোবর মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় উপজেলার এলাচিপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা সৈয়দ আবুল মাহমুদ ও মা সালেহা বেগম। 

সৈয়দ আবুল মকসুদের কর্মজীবন শুরু হয় ১৯৬৪ সালে এম আনিসুজ্জামান সম্পাদিত সাপ্তাহিক নবযুগ পত্রিকায় সাংবাদিকতার মাধ্যমে।
পরে সাপ্তাহিক 'জনতা'য় কাজ করেন কিছুদিন। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থায় (বাসস) যোগ দেন। সৈয়দ আবুল মকসুদ সাংবাদিকতার পাশাপাশি সাহিত্যিক হিসেবেও খ্যাতিমান ছিলেন। ১৯৮১ সালে তার কবিতার বই বিকেলবেলা প্রকাশিত হয়। মানবাধিকার, পরিবেশ, সমাজসহ নানা বিষয়ে তিনি কবিতা, প্রবন্ধ নিবন্ধ লিখেছেন। 

বাংলা সাহিত্যে সামগ্রিক অবদানের জন্য তিনি ১৯৯৫ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।
উল্লেখ্য, গত ১৩ই ফেব্রুয়ারি রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে সৈয়দ আবদুল মকসুদ করোনা ভাইরাসের টিকা নেন।
তথ্যের উৎস: দৈনিক মানবজমিন

বড়লেখায় মরহুম লুৎফুর রহমানের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া

বড়লেখায় মরহুম লুৎফুর রহমানের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় মডেল মাদ্রাসার ভবণের মালিক মরহুম লুৎফুর রহমান সাহেব এর রুহের মাগফিরাতে দোয়া মাহফিল ও অভিভাবক সমাবেশের আয়োজন করে বড়লেখা মডেল মাদ্রাসা। সভাপতিত্ব করেন মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল  মাও. মুহিবুর রহমান।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাদ্রাসার সভাপতি ও বড়লেখা উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এমাদুল ইসলাম, বিশিষ্ট সমাজসেবক জনাব ফয়সল আহমদ ও লুৎফুর রহমান প্রমূখ।

কুড়িগ্রামে সাংবাদিক বোরহান হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন

কুড়িগ্রামে সাংবাদিক বোরহান হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন

মোঃইয়ামিন সরকার আকাশ,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট বাজারে পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনের সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত অনলাইন নিউজ পোর্টাল 'বার্তা বাজার' ও দৈনিক বাংলাদেশ সমাচারের নোয়াখালী প্রতিনিধি বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির-কে হত্যার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবীতে সারাদেশের ন্যায় কুড়িগ্রামেও মানববন্ধন ও  প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কুড়িগ্রাম জেলা শহরস্থ শাপলা চত্বরে এ মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নেন কুড়িগ্রাম প্রেস ক্লাব, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরাম, ইউনাইটেড প্রেস ক্লাব,বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ও প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সংবাদিকবৃন্দ।

এসময় বক্তব্য রাখেন, দৈনিক কুড়িগ্রাম খবর এর প্রকাশক ও সম্পাদক এসএম ছানালাল বকসী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আহ্বায়ক ও চ্যানেল আই এর কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি শ্যামল ভৌমিক, ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটির সভাপতি দুলাল বোস, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক,  এটিএন নিউজ ও এটিএন বাংলার কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ইউসুফ আলমগীর, ডিবিসি নিউজ এর কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ওয়াহিদুজ্জামান তুহিন, যমুনা টেলিভিশন এর জেলা প্রতিনিধি নাজমুল হোসেন,  বাংলা ট্রিবিউন ও ঢাকা ট্রিবিউন এর কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল ইসলাম রিগান, ইউনাইটেড প্রেস ক্লাব এর সাধারণ সম্পাদক রাশিদুল ইসলাম,মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের আলমগীর হোসেন ও বার্তা বাজার এর কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি সুজন মোহন্ত প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, এভা‌বে সাংবা‌দিক নি‌পীড়ন ও হত‌্যা মে‌নে নেওয়া যায় না। অবিলম্বে সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কিরকে গুলি করে হত্যাকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। সারা‌দে‌শে সংবাদকর্মীদের হয়রা‌নী বন্ধ করার পাশাপা‌শি সংবাদকর্মী‌দের নিরাপত্তা নি‌শ্চিত করার দা‌বি জানান বক্তারা।

শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৫ টার দিকে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট বাজারে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষ শুরু হলে তা থামাতে উভয়পক্ষের ওপরে অ্যাকশনে নামে পুলিশ। ত্রিপক্ষীয় মারমুখী এই পরিস্থিতিতে গুলিবর্ষণের ঘটনাও ঘটে। এসময় বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন, তাদেরই একজন অনলাইন পোর্টাল বার্তাবাজারের স্থানীয় প্রতিনিধি বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির। পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় কোনও এক পক্ষের গুলিতে রক্তাক্ত হন মাত্র ২৫ বছর বয়সী এই সাংবাদিক। উন্নত চিকিৎসা দিতে ঢাকায় আনা হলেও বাঁচানো সম্ভব হয়নি তাকে। স্থানীয় রাজনীতির বলি হয়ে ২০ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) তিনি চলে যান না ফেরার দেশে।

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে অবৈধভাবে মাটিকাটা ও নকল জর্দা ফ্যাক্টরিকে জরিমানা

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে অবৈধভাবে মাটিকাটা ও নকল জর্দা ফ্যাক্টরিকে জরিমানা

বিশেষ প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে পৃথক পৃথক স্থানে নকল
জর্দার ফ্যাক্টরি ও অবৈধভাবে ফসলি জমি থেকে মাটি কাটার জন্য ৮০ হাজার
টাকা জরিমানা করেছেন ইউএনও। মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রয়ারি সকাল থেকে দুপুর
২ টা পর্যন্ত ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন ঘাটাইলের ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অঞ্জন কুমার সরকার।
ইউএনও জানান, ফসলি জমি থেকে ভ্যাকু মেশিন দিয়ে মাটি কাটা হচ্ছে এ খবর পাওয়ার পর সকালে উপজেলার দিঘলকান্দি ও দেওলাবাড়ি দুই এলাকায় অভিযান চালিয়ে মোট ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জীবনে আর
ভ্যাকু দিয়ে মাটি কাটবে না এই মর্মে মুচলেকা দিলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।পরে বিকেল ৩ টার দিকে উপজেলার রৌহা গ্রামে অবৈধভাবে গড়ে তোলা শরীফ কেমিক্যাল কোম্পানি নামে এক জর্দা ফ্যাক্টরিকে ৫০ হাজার টাকা

জরিমানা করা হয়। এসময় নকল জর্দা তৈরির কাঁচামাল তামাক পাতার কুঁচি পুড়িয়ে দেওয়া হয় এবং কিছু উপাদান সংগ্রহ করা হয়। \

কুষ্টিয়া দৌলতপুরে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের মাসব্যাপী ফুটবল প্রশিক্ষণের সমাপনী

কুষ্টিয়া দৌলতপুরে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের মাসব্যাপী ফুটবল প্রশিক্ষণের সমাপনী

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ  কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ক্রীড়া পরিদপ্তর, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের ২০২০-২১  বার্ষিক ক্রীড়া কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ২৩-০২-২০২১ (মঙ্গলবার)  বিকেল ৪ ঘটিকায়  উপজেলার খাস  মথুরাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে মাসব্যাপী এই প্রতিযোগিতা প্রশিক্ষণের সমাপনী প্রতিযোগিতা ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শারমিন আক্তার উপজেলা নির্বাহী অফিসার দৌলতপুর,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সরদার আবু সালেক উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার দৌলতপুর,  টিপু নেওয়াজ সভাপতি মথুরাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, আব্দুর রশিদ প্রধাণ শিক্ষক মথুরাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়,মাহফুজুল কালাত সাধারণ সম্পাদক উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা দৌলতপুর কুষ্টিয়া। 
অনুষ্ঠানটিতে  সভাপতিত্ব করেন জনাব তানভীর হোসেন জেলা ক্রীড়া অফিসার কুষ্টিয়া।

সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির'র হত্যাকারীদের শাস্তির দাবীতে চট্টগ্রাম প্রসক্লাবের সামনে মানববন্ধন

সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির'র হত্যাকারীদের  শাস্তির দাবীতে চট্টগ্রাম প্রসক্লাবের সামনে মানববন্ধন

হাসান রিফাত,চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃনোয়াখালির কোম্পানীগঞ্জে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার ও বার্তা বাজারের প্রতিনিধি উদীয়মান সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির'র হত্যাকারীদের চিনহিত করে শাস্তির দাবীতে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম চট্টগ্রাম জেলা ।
মঙ্গলবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণে এই মানববন্ধন কর্মসূচী করা হয় ।সাংবাদিক এম এ আশরাফ এর সঞ্চালনায় বিএমএসএফ চট্টগ্রাম জেলার সাঃ সম্পাদক জুনায়েদ হাসান'র সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রধান, এস এম আজিজ , চট্টগ্রাম রিপোর্টার্স ক্লাবের সাঃ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম । আরো বক্তব্য রাখেন  , সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম , সাংবাদিক আবুল কালাম সহ আরো অনেকেই। 

এ সময় বক্তারা সারাদেশে সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধের দাবীতে ও নোয়াখালির কোম্পানীগঞ্জে উদীয়মান সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির'র হত্যাকারীদের চিনহিত করে আইনের আওতায় এনে দ্রুত শাস্তি নিশ্চিত করার দাবী জানান। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচীরও হুঁশিয়ারি দেন বক্তারা ।

মানবনববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএমএসএফ সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুর আহমেদ সোহেল, অর্থ সম্পাদক, আব্দুল কাদের রাজু, যুগ্ম সম্পাদক মোঃ হোসেন, সহ অর্থ সম্পাদক ইয়াসিন আরাফাত কাজল, সহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

এছাড়াও প্রতিবাদ সমাবেশে একাত্মতা প্রকাশ করে চট্টগ্রাম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের   নেতৃবৃন্দরা  উপস্থিত ছিলেন ।

লালমনিরহাটে প্রস্রব করতে গিয়ে মিলল পুলিশের হারিয়ে যাওয়া গুলিভর্তি ম্যাগাজিন

লালমনিরহাটে প্রস্রব করতে গিয়ে মিলল পুলিশের হারিয়ে যাওয়া  গুলিভর্তি ম্যাগাজিন

রশিদুল ইসলাম রিপন লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি:লালমনিরহাটে কর্মরত খালেকুল বাদশা নামে এক এসআইয়ের হারিয়ে যাওয়া গুলিভর্তি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার রাত ৮টার দিকে কলেজ বাজার এলাকায় প্রস্রাব করতে গিয়ে রফিকুল নামে এক পথচারী গুলিভর্তি ম্যাগাজিনটি দেখতে পেয়ে ৯৯৯ এ কল দিলে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তা উদ্ধার করে।

পথচারী রফিকুল ইসলাম জানান, তার প্রসাবের বেগ আসলে সে কলেজ বাজারের একটি পরিত্যক্ত এলাকায় মোবাইলের লাইট জ্বালিয়ে প্রসাব করতে যান। প্রসাব করার আগেই মোবাইলের লাইটের আলোয় সোনালি বর্ণের কিছু একটা দেখতে পেলে সে একটা লাঠি দিয়ে খোঁচালে গুলি ভর্তি একটি ম্যাগাজিন দেখতে পায়। পরে সেখান থেকে বেরিয়ে এসে ৯৯৯ কল দিলে সদর থানা পুলিশ এসে ৭ রাউন্ড গুলিসহ ম্যাগজিন উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি শাহ আলম ম্যাগজিনসহ গুলি উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এর আগে এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার হয়েছে। আজ বাকি ৭ রাউন্ড গুলি উদ্ধার হলো। গুলিভর্তি ম্যাগাজিন সেখানে কেউ লুকিয়ে রেখেছিল কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, অভিযান চালানোর সময় এসআই বাদশা তার ব্যবহৃত পিস্তলের গুলিভর্তি ম্যাগজিন হারিয়ে ফেলেন। এরপর বিষয়টি থানায় না জানিয়ে গোপন রাখলে ওই দিনই তাকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়।

গত ২৮ জানুয়ারি সোমবার লালমনিরহাট সদর উপজেলার কলেজ বাজার এলাকায় আসামি গ্রেফতার করতে গিয়ে গুলিসহ ম্যাগজিন হারান এসআই খালেকুল বাদশা।

শ্যামনগরে সংবাদ সংগ্রহকালে কৈখালী চেয়ারম্যান শেখ আব্দুর রহিম কর্তৃক সাংবাদিক লাঞ্চিত

শ্যামনগরে সংবাদ সংগ্রহকালে কৈখালী চেয়ারম্যান শেখ আব্দুর রহিম কর্তৃক সাংবাদিক লাঞ্চিত

হুদা মালী,শ্যামনগর প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা,শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শেখ আব্দুর রহিম কর্তৃক সাংবাদিক আক্তার হোসেন লাঞ্চিত। ঘটনা সূত্রে জানায় কৈখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শেখ আব্দুর রহিম। সরকারি কর্তৃক সুন্দরবন সংল্গ গোলাখালী নিষিদ্ধ এলাকা থেকে চেয়ারম্যান বালু উত্তোলন করেন। সাতক্ষীরা দৈনিক পত্রদূত পত্রিকার রমজাননগর ইউনিয়ন প্রতিনিধি আক্তার হোসেন অবৈধ বালু উত্তোলনের সংবাদ সংগ্রহ করে প্রকাশিত করেন। 

গত ২২ ফেব্রয়ারী সাংবাদিক আক্তার হোসেন সংবাদ সংগ্রহ করতে কৈখালীর,জয়াখালী মোড়ে পৌঁছলে চেয়ারম্যান শেখ আব্দুর রহিম সাংবাদিক আক্তার হোসেনের পথ অবরদ্ধ করেন।

 আক্তার হোসেনের মটরসাইকেল থেকে নামিয়ে বিভিন্ন অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ সহ ধাক্কাধাক্কি করেন। পরে সাংবাদিক আক্তার হোসেন বিষয়টি সুন্দরবন প্রেস ক্লাবের সহকর্মীদের জানাই। এই নিয়ে স্থানীয় সাংবাদিক মহল ফুঁসে উঠা সহ তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন। স্থাণীয় সাংবাদিকরা বলেন, সংবাদ মাধ্যমসহ মতপ্রকাশের স্বাধীনতার জন্য বড় হুমকি হয়ে উঠেছে সাম্প্রতিক 'ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন'। এমন আইন ও নানারকম ভয়ভীতি-হুমকির কারণে সাংবাদিকতার পরিসর সংকুচিত হয়ে উঠছে।

সাংবাদিকতা শারীরিকভাবে হামলা ও হেনস্থর শিকার হতে হচ্ছে সাংবাদিকদের। এবং হামলা-নির্যাতন সাংবাদিকতা পেশাকে আরও ঝুঁকিপূর্ণ করে তুলছে।পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকদের ওপর হামলা, নির্যাতন ও হয়রানির ঘটনা ক্রমাগত বাড়ছে। অনেক ক্ষেত্রে সাংবাদিক নির্যাতনের এসব ঘটনা ঘটছে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নাকের ডগায়। সাংবাদিকরা যে শুধু সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে ঘটনাস্থলে প্রকাশ্যে এমন হামলার শিকার হচ্ছেন তা নয়; দেশের বিভিন্ন স্থানে পূর্বপরিকল্পিতভাবে সাংবাদিকদের ওপর চোরাগোপ্তা হামলা চালানোর বহু ঘটনা ঘটেছে।আরও উদ্বেগজনক হলো সাংবাদিকদের ওপর হামলা-নির্যাতনের বেশিরভাগ ঘটনারই সুষ্ঠু বিচার হচ্ছে না। 

 কৈখালী ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আব্দুর রহিমের কাছে মোবাইলে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিক লাঞ্চিত ঘটনা অশিকার করেন।

আদিবাসী সহ সবার নিরাপত্তায় ব্যর্থ সরকার : মোমিন মেহেদী

আদিবাসী সহ সবার নিরাপত্তায় ব্যর্থ সরকার : মোমিন মেহেদী

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ  নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী বলেছেন, প্রশাসনের খন্দকার মোস্তাকদের দুর্নীতির কারণে আদিবাসী সহ সবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হয়েছে সরকার।

২৩ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০ টায় প্রেসিডিয়াম মেম্বার বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত 'আদিবাসী সহ সবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দায়িত্ব' শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। এসময় নতুনধারার চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী আরো বলেন, নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধিদেরকে এখনই ঐক্যবদ্ধ হয়ে অন্যায়-অপরাধ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়তে হবে। কাউন্সিলর রোজীর মত অপরাধী ধর্ষণ সহযোগিদেরকে কঠোর শাস্তির আওতায় আনতে হবে। সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রী, রাকিব হাসান শাওন, রিয়াজ শিকদার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।  

পটিয়ায় ড. ধর্মসেন মহাস্থবিরের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উদযাপন পরিষদের স্বেচ্ছাসেবক উপ কমিটি’র শপথ অনুষ্ঠান সম্পন্ন

পটিয়ায় ড. ধর্মসেন মহাস্থবিরের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উদযাপন পরিষদের স্বেচ্ছাসেবক উপ কমিটি’র শপথ অনুষ্ঠান সম্পন্ন

সেলিম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টারঃ বাংলাদেশী বৌদ্ধদের সর্বোচ্চ ধর্মীয়গুরু সংঘরাজ ড. ধর্মসেন মহাস্থবির এর জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উপলক্ষে পটিয়া উপজেলা জঙ্গলখাইন ইউনিয়নে উনাইনপুরা লংকারাম এলাকায় দুই দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে ২২ ফেব্রয়ারী সন্ধ্যায় জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উদযাপন পরিষদের স্বেচ্ছাসেবকের উপ কমিটির শপথ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। এ সময় শপথ বাক্য পাঠ করান সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় অন্ত্যোষ্টিক্রিয়ার উদযাপন পরিষদের প্রচার ও প্রকাশনা উপকমিটির চেয়ারম্যান ড. সংঘপ্রিয় মহাথেরো। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উদযাপন পরিষদের কার্যকারী সভাপতি অজিত  বড়ুয়া, সহ-সভাপতি লায়ন আদর্শ কুমার বড়ুয়া, অর্থ উপ কমিটির সাধারণ সম্পাদক বুধি প্রিয় মহাস্থবির, আওয়ামী লীগ নেতা মাস্টার সন্তোষ বড়ুয়া, উদযাপন পরিষদের স্বেচ্ছাসেবক উপ কমিটির প্রধান প্রজ্ঞা জ্যোতি বড়ুয়া লিটন,  সহ প্রধান সীমান্ত বড়ুয়া শিমাজু, রিটন বড়ুয়া, উত্তম বড়ুয়া, রাজীব বড়ুয়া, স্বেচ্ছাসেবক মহিলা উপ-প্রধান রনি বড়ুয়া, প্রিয়া বড়ুয়া, টুম্পা বড়ুয়া, সৈকত বড়ুয়া প্রমুখ। 

যুদ্ধ জয়ে গাথা হৃদয় শীল

যুদ্ধ জয়ে গাথা           হৃদয় শীল

বিনীদ্র প্রহর!
 নির্ঘুম শত সহস্র রাত,
এদেশ তোমার এদেশ আমার;     এদেশ ছিল ত্রিশ লক্ষ আর- তরুন জনতার।
এদেশ ছিল পল্লীমায়ের,
মাটির থালায় ভাত নিয়ে বসে থাকার।
এদেশ ছিল বৃদ্ধ পিতার,ভাংগাচোড়া চশমাটা খুঁজে দেওয়ায়,
"দু'মুটো ভাতে ভাত সেদ্ধ করে খাওয়াবে এসে সোনা আমার।" এদেশ ছিল নববধূর করুন হাহাকার,
স্বামী তার যুদ্ধে গেছে, ফিরবে না বুঝি আর।
এদেশ ছিল ছোট্ট বোনের, মেলায় গেলে পুতুল কিনবে ভূলোনা আমার,
 যার ধর্ষিতা দেহ পরে ছিল গাছ তলায়।
এদেশ তোমার এদেশ আমার এদেশ ছিল ত্রিশ লক্ষ আর - তরুন জনতার।

লেখক-কবি হৃদয় শীল বিএ(অধ্যায়নরত)
নাগরপুর সরকারি কলেজ, নাগরপুর,টাংগাইল।

নাগরপুরে বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক পরিষদের মাসিক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

নাগরপুরে বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক পরিষদের মাসিক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

হাসান সাদী,নাগরপুর(টাংগাইল)প্রতিনিধি: বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক পরিষদ, নাগরপুর উপজেলা শাখা নব নির্বাচিত সভাপতি  ডা.এম.এ.মান্নান এর সভাপতিত্বে নব নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক ডা.মন্জুরুল ইসলামের পরিচালনায় কমিটির নেত্ববৃন্দের নিয়ে আজ মংগলবার , ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রি.বেলা ৪.০০ টায় মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্র,নাগরপুরে মাসিক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আজকের  মাসিক সভা শুরু হয় পবিত্র কোরআন পাঠের মাধ্যমে। প্রবিত্র কুরআন পাঠ করেন ডা.শফিকুল ইসলাম। উপস্হিতি সকলের পরামর্শক্রমে আগামী ৫ মার্ ২০২১ খ্রি. শুক্রবার বেলা ৩.০০ টায় পূর্নরায়  এক জরুরী সভা করার জন্য সিদ্ধান্ত নেয়। 

 আলোচনা সভায় উপস্হিত ছিলেন,সহ সভাপতি ডা.মো.আজিজুর রহমান, সহ সভাপতি ডা.মো.শাহ আলম, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ডা.মো.ছিদ্দিক মিয়া,অর্থ সম্পাদক ডা.মো.আ.ওহাব, ক্রিড়া বিষয়ক সম্পাদক ডা.রিপন চন্দ্র, ডা.সুলতান মিয়া,ডা.সুলতানা আক্তার প্রমুখ।

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সাংবাদিক মুজ্জাকির হত্যার বিচারের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সাংবাদিক মুজ্জাকির হত্যার বিচারের  দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ

নাঈমুর রহমান কুয়াকাটা প্রতিনিধি  : নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যায় জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা মানবন্ধন ও সমাবেশে করেছে ।

মঙ্গলবার বেলা ১১টা থেকে কলাপাড়া প্রেসক্লাব চত্বরে সড়কে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন সাংবাদিকরা। মানববন্ধনে সাংবাদিকদের দাবির সাথে, মানবাধিকার কর্মী, পরিবেশকর্মী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিগণ সংহতি প্রকাশ করেন।

এ সময় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, মেজবাহ উদ্দিন মান্নু সাবেক সভাপতি কলাপাড়া প্রেসক্লাব , অমল মুখার্জি সদস্য কলাপাড়া প্রেসক্লাব, জসিম পারভেজ সদস্য কলাপাড়া প্রেসক্লাব, এসকে রঞ্জন সভাপতি কলাপাড়া রিপোটার্স ক্লাব, নিল রতন কুন্ড সভাপতি কলাপাড়া সাংবাদিক ক্লাব সহ কলাপাড়া সাংবাদিক সংগঠনের সদস্য বৃন্দ।  

বক্তারা বলেন রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির ,  একই দাবিতে একযোগে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের উদ্যোগ  প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন  করেন সাংবাদিকরা

নড়াইলে আদালতের নির্দেশে মৃত্যুর ছয় মাস পরে কবর থেকে গৃহবধূর লাশ উত্তোলন

নড়াইলে আদালতের নির্দেশে মৃত্যুর ছয় মাস পরে কবর থেকে গৃহবধূর  লাশ উত্তোলন

মোঃ  আজিজুর বিশ্বাস,স্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃ নড়াইলে আদালতের আদেশে মৃতুর    ছয় মাস পর ময়না তদন্তের জন্য  নড়াইল জেলা এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আলাউদ্দিন এর উপস্থিতিতে কবর থেকে লাশ উত্তোলন করা হয়েছে।

 মামলা সূত্রে জানা যায়। নড়াইল সদর থানার যদুনাথপুর গ্রামের,,,, মেয়ে তন্নীর লোহাগাড়া উপজেলার মাকড়াইল গ্রামের তবিবার মৃধার ছেলের সাথে চার বছর আগে বিবাহ হয়। বিবাহর পর থেকে যৌতুকের জন্য মারধর করতো তন্নিকে। তন্নির      পরিবারের  অভিযোগ তন্নীকে   স্বামীসহ তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন শ্বাসরোধ করে মেরে ফেলেছে।

 তন্ননির ভাই , বাদী বলেন আমার বোনকে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন মেরে আমাদের সংবাদ দেন স্টক করে মারা গেছে। সেভাবে আমরা মাটি দিয়ে দেই, পরে খোজ খবর নিয়ে জানতে পারি যে আমাদের বোনকে ওরা শ্বাসরোধ করে মেরেছে।তারপর আমি আদালতের শরণাপন্ন হই। এবং দোষীদের শাস্তির দাবি করেন তিনি। এলাকাবাসী মনু মিয়া দোষীদের ফাঁসি দাবি করেন।

এ বিষয়ে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট  মোঃ আলাউদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন  নড়াইল বিজ্ঞ আদালতের  আদেশে লাশের ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে লাশ উত্তোলন করা হয়েছে ।

মার্চেই বিশ্ববিদ্যালয় খোলা চায় জবি শিক্ষার্থীরা

মার্চেই বিশ্ববিদ্যালয় খোলা চায় জবি শিক্ষার্থীরা

জবি প্রতিনিধি: প্রায় এক বছর বন্ধ থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আগামী ২৪ মে খুলতে যাচ্ছে। আর এই সময়ের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্ট শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা কর্মচারীসহ সকলকে করোনার টিকা দেওয়া হবে। তবে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার আগ পর্যন্ত সকল ধরনের পরীক্ষা বন্ধ থাকবে। গতকাল সোমবার এক ভার্চুয়াল মাধ্যমে এই সিদ্ধান্ত জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

মন্ত্রণালয়ের এমন সিদ্ধান্তে নারাজ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীরা। তিন মাস পর বিশ্ববিদ্যালয় খুলবে এমন সিদ্ধান্ত আসার পর বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায় শিক্ষার্থীদের।শিক্ষার্থীরা মনে করে দেশের সবকিছুই তো স্বাভাবিক ভাবে চলছে, তাহলে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এখনই খুলতে সমস্যা কোথায়। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের মাঝে সেশনজটের চিন্তাতো রয়েছেই।

তিন মাস পর বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্তে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী নাজমুল ইসলাম বলেন,আমি মনে করি আমাদের দেশে করোনার পরিস্থিতি এখন অন্যান্য দেশের তুলনায় যথেষ্ট ভালো এমতাবস্থায় সরকারের এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণযোগ্য নয়। শিক্ষার্থীরা পড়ালেখা থেকে যেভাবে পিছিয়ে পড়ছে ঠিক একইভাবে দীর্ঘদিন বাসায় থাকার ফলে মানসিকভাবে দূর্বল হয়ে পড়ছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ জহির উদ্দিন এ বিষয়ে বলেন, যখন দেশের সবকিছুই স্বাভাবিক ভাবে চলছে এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসের কার্যক্রম চলছে তাহলে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ রাখার কোনো যৌক্তিকতা দেখিনা। মে মাসের দিকে খুললে আমরা ৬ মাসের একটা সেশনজটে পরার আশঙ্কা রয়েছে, কিন্তু মার্চে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিলে বিগত সেমিস্টার গুলোর পরীক্ষা নিয়ে নিলে এই সেশনজটে নাও পরতে হতে পারে।

উল্লেখ্য যে, করোনা মহামারীর কারণে প্রায় এক বছর ধরে বন্ধ রয়েছে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। এরই মধ্যে হল খোলার দাবিতে একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে আগামী ২৪ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ক্লাস শুরু করার সিদ্ধান্ত জানান শিক্ষামন্ত্রী।

যশোরে বাড়ি করার জন্য চাঁদাবাজিদের দিন শেষ

যশোরে বাড়ি করার জন্য চাঁদাবাজিদের দিন শেষ

সুমন হোসেন, যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ
যশোরে কোনো ব্যক্তিমালিকানায় বাড়ি নির্মানে বাধা দিয়ে চাঁদা দাবি করলে তাকে পুলিশে দেওয়া কথা বলা হয়েছে। যদি কোনো ব্যক্তি বাড়ি নির্মানে বাধা দেয়, তবে তা পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়াদার নিজে ব্যবস্থা করবেন বলে জানিয়েছে। যশোরে নানা ধরনের চক্র আছে যারা কিনা ফাদ পেতে এক শ্রেনির লোক চাঁদা বাজি করে আসছিল।  সুত্র পেয়ে সদ্য জয়িন করা পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার এই পদহ্মেপ নেন।  এ বিষয়ে বিশেষ প্রতিবেদন জারি করেন যশোর জেলা পুলিশ। বাড়িওয়ালা নিজ পছন্দ মতো সুবিধাজনক জায়গা থেকে ইট, বালি, রড ক্রয় করবে। কেউ ইচ্ছার বিরুদ্ধে কোনো প্রকার নির্মান সামগ্রী  ক্রয় ও বিক্রয়ে বাধ্য করলে অথবা  চাঁদা দাবি করলে কঠোর আইনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন যশোর জেলা পুলিশ। যেকোনো নির্মান সম্পর্কে কোনো অভিযোগ থাকলে নিন্মলিখিত নাম্বারে যোগাযোগের জন্য বলা হয়েছে
৩নং বিট ইনচার্জ -০১৩২০-১৪৩১৮৮
অফিসার ইনচার্জ,  কতোয়ালী মডেল থানা-০১৩২০-১৪৩১৮০
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, ক সার্কেল, যশোর-০১৩২০-১৪৩১৪৫
পুলিশ সুপার,যশোর-০১৩২০-১৪৩১০০

শ্যামনগর মুন্সীগঞ্জে মৎস্য চাষীদের দেওয়া সরকারি বিশেষ প্রণোদনায় অনিয়মের অভিযোগ

শ্যামনগর মুন্সীগঞ্জে মৎস্য চাষীদের দেওয়া সরকারি বিশেষ প্রণোদনায় অনিয়মের অভিযোগ

হুদা মালী শ্যামনগর প্রতিনিধি: বাংলাদেশের দক্ষিণে অবস্থিত সাতক্ষীরা জেলা। এই জেলা থেকে মৎস্য রপ্তানি হয় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে।মৎস্য রপ্তানিতে দেশের অর্থনৈতিক গুরুত্বপূর্ণ  ভূমিকা রাখে জেলাটি। সম্প্রতি বুলবুল,আম্পান ও মাহামারী করোনার কারণে ভাটা পড়ে যায় মৎস্য চাষে,বিপাকে পড়ে ছোট বড় প্রান্তিক মৎস্য চাষীরা।
 সরকারি ভাবে কিছু আথিক সহযোগিতার করার লক্ষে কাজ শুরু করে উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর,শুরু হয় তালিকা প্রনয়ন। তালিকা প্রনয়নে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতা নেওয়ার কথা থাকলেও সেটা মানা হয়নি।

জনপ্রতিনিধিদের করা প্রকৃত মৎস্য চাষীদের তালিকা বাদ দিয়ে মৎস্য কর্মকর্তা নিজের লোক দিয়ে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে তালিকা প্রনয়ন করে টাকা বিতরণ করেছেন এমন অভিযোগ পাওয়া যায়।

এসকল অনিয়ম ঢাকতে কিছু মিডিয়া কমী ও স্থানীয় ইউপি সদস্যদের তালিকাভুক্ত করেন মৎস্য কর্মকর্তা  তুষার মজুমদার ও ইউনিয়ান মৎস্য লিপ বিশ্বজিত (বাপির)। অভিযোগে জানাযায়, শ্যামনগর উপজেলার মুন্সীগঞ্জ ইউনিয়নে প্রকৃত মৎস্য চাষীদের বাদ দিয়ে যারা কোন প্রকার মৎস্য চাষের সাথে জড়িত না তাদেরকে এই সরকারি বিশেষ প্রণোদনা দিয়েছেন।

 উপজেলা মৎস্য কমকতা তুষার মজুমদার ও তার ইউনিয়ন মৎস্য  লিপ বিশ্বজিত মন্ডল (বাপি) কে দিয়ে মৎস্য চাষীদের তালিকা প্রনয়ন করে। তালিকা অনুযায়ী গত ১৭ ফেব্রুয়ারি বিকাশ ও নগদের মাধ্যমে শ্রেণীভেদে কিছু সংখ্যক উপকারভোগীকে টাকা প্রদান করে। সেই তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন অধিকাংশ  প্রকৃত  মৎস্য চাষীরা। 
 
সরজমিনে দেখা যায়, মুন্সীগঞ্জ পশ্চিম ধানখালির কেশব জোয়ারদার,রামপ্রসাদ,হরিনগরের জগদিশ,সামছুল, উত্তর কদমতলার আমেনা বেগম সহ আরো একাধিক ব্যক্তি মৎস্য চাষের সাথে জড়িত না,তারপরও বিশেষ প্রণোদনা থেকে বাদ যাননি তারা। কি ভাবে সরকারি নিয়ম না মেনে টাকা পায়,এমন প্রশ্ন প্রকৃত মৎস্য চাষীদের।

এদিকে প্রকৃত মৎস্য চাষীদের নাম ও ভোটার আইডি কাড জমা নিলেও বঞ্চিত সরকারি প্রণোদনা থেকে।প্রকৃত মৎস্য চাষীদের মধ্যে মজিবুর,মজাহার,আজিজুর রহমান সহ অনেকে বলেন, কাগজ পত্র সহ সব কিছু জমা দিয়েছি এবং কিন্তু আমার টাকা আসিনি তালিকায়ও নাম নেই, শুনলাম যাদের ঘের নেই তারা টাকা পেয়েছে। 

এছাড়া তালিকা প্রনয়নে করা হয়েছে স্বজনপৃতি। তালিকা প্রনয়ন কারী বাপি সরদার মুন্সীগঞ্জ ইউনিয়নের ৪নং ওয়াডের বাসিন্দা হওয়ায় সেই ওয়াড থেকে অধিকাংশ তালিকা ভুক্ত করা হয়েছে। 

এ বিষয় মুন্সীগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম মোড়ল বলেন, মৎস্য চাষীদের তালিকা প্রনয়নে আমাদের অবহিত করার কথা থাকলেও  মৎস্য অফিসার আমাকে না জানিয়ে নিজের ইচ্ছা মত প্রকৃত মৎস্য চাষীদের বাদ দিয়ে যারা মৎস্য চাষের সাথে জড়িত না তাদেরকে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে তালিকা ভুক্ত করে টাকা দিয়েছেন। আমি বিষয়টা উপজেলা নিবাহী কমকতা বরাবর লিখিত অভিযোগ করতেছি। 

তালিকা প্রনয়ন কারি বিশ্বজিত বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে সব অভিযোগ উঠেছে সেটা সত্য নয়। আমি ও বুদ্ধো দুইজন মিলে কাগজ পত্র দিয়ে অনলাইনে আবেদন করিয়েছি এছাড়া আর কিছু জানিনা।


অভিযোগের বিষয় শ্যামনগর উপজেলা মৎস্য কমকতা তুষার মজুমদার বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে সেগুলো সম্পন্ন মিথ্যা।স্থানীয় প্রতিনিধিদের নিয়ে সঠিক তালিকা করা হয়েছে। অর্থ লেনদেনের বিষয় আমার অফিসের কেও জড়িত থাকলে তার ব্যাবস্থা নেওয়া হবে। আর যারা মৎস্য চাষের সাথে জড়িত না থেকে টাকা নিয়েছে এমন বিষয় থাকলে তদন্ত করে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যাকান্ডের বিচারের দাবিতে দৌলতখানে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ

সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যাকান্ডের বিচারের দাবিতে দৌলতখানে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ

মোঃ আওলাদ হোসেন,জেলা প্রতিনিধি,ভোলা, দৌলতখানঃ নোয়াখালী কোম্পানীগঞ্জে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে নিহত সাংবাদিক বোরহানউদ্দীন মুজাক্কির হত্যাকান্ডের আসামীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন দৌলতখান উপজেলার কর্মরত সাংবিধানিকরা।
আজ মঙ্গলবার ( ২৩শে ফেব্রুয়ারী )  সকাল ১১টায় দৌলতখান প্রেসক্লাবের উদ্যোগে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স চত্বরে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত মাবনবন্ধনে দৌলতখান উপজেলার সকল দায়িত্বরত সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ একাত্নতা পোষণ করে।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন,আগামী ২৪ঘন্টার মধ্যে সাংবাদিক বোরহানউদ্দীন মুজাক্কির হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত আসামীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানান।
এছাড়াও আসামীদেরকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ সমাপ্তির পরে দৌলতখান প্রেসক্লাবে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বক্তব্য রাখেন,দৌলতখান প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও দৌলতখান আবু আব্দুল্লা কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ শ.ম ফারুক, সিনিয়র সহ সভাপতি এম তাহের,সহ সভাপতি জাকির আলম, সাধারন সম্পাদক মেহেদি হাসান শরীফ,যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মিজানুর রহমান,সাংবাদিক সাগর চৌধুরী, রোহানুল ইসলাম শোয়েব, তানভীর আহমেদ মৃধা,আহমেদ শফি,এম মিরাজ হোসাইন ও অন্যান্য সাংবাদিকবৃন্দ।

সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে ঝালকাঠিতে মানববন্ধন

সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে ঝালকাঠিতে মানববন্ধন

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার  নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে ঝালকাঠিতে মানববন্ধন করেছে ঝালকাঠি টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতি। মঙ্গলবার বেলা ১২ টার দিকে ঘণ্টাব্যাপি ঝালকাঠি সদর থানা সড়কের অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে স্থানীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা বক্তব রাখেন। মানববন্ধনে বক্তারা অবিলম্বে মুজাক্কির হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করেন। এছাড়া সাংবাদিকদের সুরক্ষার আইন প্রনয়নেরও দাবি করা হয় এ কর্মসূচি থেকে। বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক কাজী খলিলুর রহমান, জিয়াউল হাসান পলাশ, পলাশ রায়, আজমীর হোসেন, শফিউল আজম টুটুল, এসএম রেজাউল করিম, আতিকুর রহমান, রুহুল আমিন রুবেল ও যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

নড়াইলে সাবু হত্যা মামমলার দুই আসামী ঝিনাইদাহ থেকে গ্রেফতার

নড়াইলে সাবু হত্যা মামমলার দুই আসামী ঝিনাইদাহ থেকে গ্রেফতার

মোঃ আজিজুর বিশ্বাস,স্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃনড়াইলে সাবু মোল্যা হত্যা মামলার দুই আসামী কে গ্রেফতার করেছে নড়াইল সদর থানা পুলিশ।
সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারী) রাত ১১ টার দিকে  মিরান মোল্যা ও রবি মোল্যা নামে ওই দুই ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,নড়াইল সদর থানাধীন সিংঙ্গিয়া গ্রামের সাবু মোল্যা হত্যা মামলার এজাহারনামীয় আসামী ১.মিরান মোল্যা (৪০) পিতাঃ গোলাম মোস্তফা মোল্যা গ্রাম:কোমখালী (বর্তমান সিঙ্গিয়া) এবং উক্ত মামলার সন্দিগ্ধ আসামী ২. রবি মোল্যা গ্রাম: কোমখালী (বর্তমান সিঙ্গিয়া) উভয় থানা ও জেলা নড়াইল দের কে গোপন সংবাদ এর ভিত্তিতে ঝিনাইদহ থানাধীন পাবহাটি এলাকা থেকে নড়াইল সদর থানা পুলিশের এ এস আই আনিস এর নেতৃত্বে এস আই জিল্লুর রহমান এবং ঝিনাইদাহ থানা পুলিশের এস আই ইউসুব এর সহযোগিতায় গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।


নড়াইল সদর থানা পুলিশের এ এস আই আনিস জানান গোপন সংবাদ এর ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এবং ঝিনাইদাহ থানা পুলিশের সহোযগিয়ায় আসামী দুইজন কে গ্রেফতার করেছি, রাতেই তাদের নড়াইল নিয়ে আসা হয়েছে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আসামীদের আদালতে প্রেরণ প্রক্রিয়াধীন।
উল্লেখ্য, নড়াইল সদর উপজেলার হবখালী ইউনিয়নের সিংঙ্গিয়া গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে সাবু মোল্যা (৩২) নামে এক যুবক নিহত হয়।

গত মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ওই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। সাবু পার্শ্ববর্তী কোমখালী গ্রামের শফিয়ার মোল্যার ছেলে। পরে স্থানীয় লোকজন সাবুকে উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন।

ফাগুনের বিরহ আব্দুর রশিদ

ফাগুনের বিরহ আব্দুর রশিদ

বসন্তের কোকিল ডাকে 
ফাগুন মাসে ভোরবেলা 
এতো মধুর কুহু কুহু ভালো লাগে না
যখন থাকি একেলা ।

ব্যস্ত এই মানুষের ভিড়ে 
শুধু নেই ভালো আমি 
এখন আমি হয়ে গেছি 
জিন্দা একটা মমি ।

কে আমাকে শান্তনা দেবে 
এমন কেউ নাই 
আমার বোঝা আমি শুধু 
একা বয়ে বেড়াই ।

সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যায় দোষিদের শাস্তির দাবিতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন

সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যায় দোষিদের শাস্তির দাবিতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ বার্তাবাজার এর নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি বুরহান উদ্দিন মুজাক্কিরকে নির্মমভাবে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদ ও দোষিদের গ্রেফতার ও শাস্তি এবং বিচারের দাবিতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে।
মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সামনে প্রায় ঘন্টাব্যাপী এ কর্মসূচীর আয়োজন করে স্থানীয় সাংবাদিকরা। এতে ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা বক্তব্য রাখেন। সেসময় উপস্থিত ছিলেন, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও সমকাল পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি মাহমুদ হাসান টিপু, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও এস এ টিভির এবং দৈনিক বণিকবার্তা পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি ফয়সাল আহমেদ, এশিয়ান টেলিভিশন ও দৈনিক দেশ রুপান্তর পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি এম রবিউল ইসলাম রবি, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও দৈনিক নবচেতনা পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি সাজ্জাদ আহমেদ, বাংলাদেশ প্রতিদিন ও নিউজ টোয়েন্টিফোর টিভির জেলা প্রতিনিধি শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের প্রচার সম্পাদক দি ডেইলি ট্রাইবুনাল ও সকালের সময় পত্রিকা জেলা প্রতিনিধি শামীমুল ইসলাম শামীম, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের ক্রীড়া সম্পাদক, দি ডেউলি এশিয়ান এজ ও দৈনিক সময়ের আলো পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি কাজী আলী আহাম্মেদ লিকু, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের কার্যকারি নির্বাহী সদস্য ও দৈনিক শিকল পত্রিকার সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার এম এ জলিল, দৈনিক জবাবদীহি ও দেশকাল পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি এম সেলিম, দৈনিক অধিকার পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি শাহ্ আলম মিয়া, সময় টিভির জেলা প্রতিনিধি লোটাস রহমান সোহাগ, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও আমাদের অর্থনীতি পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি এবং বর্তমান ঝিনাইদহ টিভির সম্পাদক  সুলতান আল একরাম, দৈনিক জনবাণী পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি ময়না খাতুন, মুভিবাংলা টিভি, দৈনিক স্বাধীন বাংলা ও দৈনিক স্পন্দন এবং বার্তাবাজার এর জেলা প্রতিনিধি খাইরুল ইসলাম নিরব।
এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, স্বাধীন সংবাদ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি এস এম রবি, দৈনিক নাগরিক ভাবনা কাইয়ুম হুসাইন পলাশ, ট্রাইবুনাল পত্রিকার শৈলকুপা প্রতিনিধি এ কে এম ফাইজুর রহমান, নিউজ ঝিনাইদহ টিভি (আইপি) এর সম্পাদক আলিফ আবেদিন গুঞ্জন, সাংবাদিক সাজেদ আল হাসান, সমাজের কাগজ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি শেখ হৃদয় আহমেদ পিকুল, বাংলা ৭১ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি অরিত্র কুন্ডু, দৈনিক সময়ের সমীকরণ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি জাহিদুল হক বাবু, দৈনিক খুলনাঞ্চল পত্রিকার শৈলকুপা প্রতিনিধি সম্রাট হোসেন, সাংবাদিক আব্দুল্লা হৃদয়, টুটুল হোসেন, অনিক হাসান লিখন, মিশন হুসাইন, আজমীর রহমান তরুসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।
এসময় বক্তারা, সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার বলে জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান।

সিরাজগঞ্জে বাস ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৫ আহত ৩০

সিরাজগঞ্জে বাস ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৫ আহত ৩০

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৩০ জন।
সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৫ জন নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন বাসযাত্রী।
মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কে কামারখন্দের কোনাবাড়ি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে হতাহতদের উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে পাঠিয়েছে।
নিহতরা হলেন, বগুড়া জেলার শাহজাহানপুর থানার মোকছেদ আলীর ছেলে বীরমুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান (৭০), একই জেলার শেরপুর উপজেলার শ্রী ধীরেন চন্দ্রের ছেলে শ্রী বিমল (৪৬) ও সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার তামাই গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে আব্দুল হান্নান (৫৫)। বাকিদের নাম পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি।
বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোসাদ্দেক হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে বগুড়া থকে ময়মনসিংহগামী যুগান্তর এন্টারপ্রাইজের যাত্রীবাহী একটি বাস মহাসড়কের কামারখন্দের কোনাবাড়ি এলাকায় পৌঁছালে বাসের সামনের চাকা পাঙচার হয়ে যায়।
এ অবস্থায় বাসটির সঙ্গে উত্তরবঙ্গগামী একটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে বাসটি দুমড়ে-মুচড়ে রাস্তার পাশের খাদে পড়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে চারজনের মরদেহ উদ্ধার করে।
আহত অবস্থায় অন্তত ১৫ জনকে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও একজন মারা যায় বলে তিনি জানান।

নোয়াখালীর সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে পিরোজপুরে মানববন্ধন

নোয়াখালীর সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে পিরোজপুরে মানববন্ধন

মিঠুন কুমার রাজ, স্টাফ রিপোর্টার:নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে পিরোজপুর কর্মরত সাংবাদিকরা মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছেন। মুজাক্কিরের খুনিদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতারের জন্য প্রশাসনকে আল্টিমেটাম দেন তারা। নইলে বৃহত্তর আন্দোলনেরও হুঁশিয়ারি দেয়া হয়। 

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় পিরোজপুর প্রেস ক্লাব, রিপোর্টার্স ক্লাব, সাংবাদিক ফোরাম সহ কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা অংশ নেয়। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন,পিরোজপুরের মোঃ নুরুল্লাহ আল-আমিন, তালুকদার হুমায়ূন, হাসিবুল হাসান, মনিরুল ইসলাম চৌধুরী, ফরিদ শেখ, এনামুল কবির সোহেল, নাছরুল্লাহ আল কাফী, মোঃ মনিরুল ইসলাম, মোঃ মহিবুল্লাহ হাওলাদার, মোঃ শহিদুল ইসলাম, মিঠুন কুমার রাজ সহ প্রমূখ। 

পড়াশুনার পাশাপাশি দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার, অনলাইন পোর্টাল বার্তা বাজার ও চ্যানেল সিক্স এ দুই বছর ধরে সাংবাদিকতা করতেন বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির। পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে, প্রাণ গেল তার। সন্তানের এমন মর্মান্তিক মৃত্যুতে ভেঙে পড়েছেন স্বজনরা। শাস্তি চাইলেন হত্যাকারীদের।

গত শুক্রবার বিকেলে কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার চাপরাশির হাটে বসুরহাট পৌর মেয়র কাদের মির্জা ও কোম্পানিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের সংবাদ সংগ্রহের সময় গুলিবিদ্ধ হন মুজাক্কির। গুরুতর অবস্থায় তাকে ভর্তি করা হয় ঢাকা মেডিকেলে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার মারা যান তিনি।

স্বজনরা জানান, যারা এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিলো তাদের উপযুক্ত বিচার নিশ্চিত করতে হবে।এদিকে, মুজাক্কির হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচার দাবিতে জেলায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীরা মানববন্ধন ও সমাবেশ করেন। দাবি জানান, প্রকৃত খুনিরা যাতে ছাড় না পায়।

গণমাধ্যমকর্মীরা জানান, আমরা যারা এই পেসার সঙ্গে জড়িত তাদের কোন নিরাপত্তা নেই। পেশাগত দায়িত্ব পালনে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।নিহত মুজাক্কির নোয়াখালী সরকারি কলেজে দর্শন বিভাগে মাস্টার্সে অধ্যয়নরত ছিলেন। বাবা-মায়ের ৭ সন্তানের মধ্যে সবার ছোট ছিলেন তিনি।

নোয়াখালীর সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যার বিচার দাবিতে সাতক্ষীরায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

নোয়াখালীর সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যার বিচার দাবিতে সাতক্ষীরায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃ
নোয়াখালীর বসিরহাটে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যার বিচার দাবিতে,মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় সাতক্ষীরা শহরের নিউমার্কেট সংলগ্ন (শহীদ স.ম আলাউদ্দিন চত্বর) এর সামনে সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ সড়কে, সাংবাদিকসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ মুখে কালো কাপড় বেঁধে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে।

সাতক্ষীরা জেলা অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ মুনসুর রহমান এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাতক্ষীরা জেলা সাংবাদিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক শরিফুল্লাহ কায়সার সুমন, সাপ্তাহিক সূর্যের আলো সম্পাদক ও প্রকাশক আব্দুল ওয়াহাব খান চৌধুরী, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ, দেবহাটা প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর খায়রুল আলম, চ্যানেল টুয়েন্টিফোর এর আমিনা বিলকিস ময়না, নাগরিক কমিটির আলী নূর খান বাবুল, এসএম শহীদুল ইসলাম, সৈয়দ রফিকুল ইসলাম শাওন, এক্সপ্রেস নিউজ এর জেলা প্রতিনিধি মোঃ সোহরাব হোসেন  সৌরভ, দৈনিক কালের চিত্র'র স্টাফ রিপোর্টার এম ইব্রাহিম খলিল প্রমুখ।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার " বার্তা বাজার " এর নোয়াখালী প্রতিনিধি সাংবাদিক বুরহানউদ্দিন মুজাক্কির কে নির্মম ভাবে গুলি করে হত্যা কান্ডের ঘটনার জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক বিচারে দাবি জানান।

উল্লেখঃ গত ১৯ ফেব্রুয়ারি নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাটে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের সময় সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিতে তার মুখের নিচের অংশ এবং গলা ঝাঁজরা হয়ে যায়।

জানা যায়, বসুরহাট পৌরসভার মেয়র এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ভাই আবদুল কাদের মির্জা ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের সৃষ্টি হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশও ১০-১২ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোঁড়ে।

ওই সংঘর্ষে সাংবাদিক মুজাক্কিরসহ ৯ জন গুলিবিদ্ধ হন এবং আহত হন অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী, এসময় মারাত্মক আহত অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে শনিবার রাতে সেখানে সাংবাদিক মুজাক্কির এর মৃত্যু হয়।

২৮ বছর বয়সী মুজাক্কির মুজাক্কির 'দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার' ও অনলাইন পোর্টাল 'বার্তা বাজার'র স্থানীয় প্রতিনিধি ছিলেন। তিনি উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের নোয়াব আলী মাস্টারের ছেলে। নোয়াখালী সরকারি কলেজ থেকে সম্প্রতি রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর শেষ করে সাংবাদিকতায় যুক্ত হয়েছিলেন মুজাক্কির।

স্থানীয় সাংবাদিকরা জানান, মির্জা কাদের ও বাদলের অনুসারীদের ধাওয়া ও সংঘর্ষের ছবি তোলার সময় হামলাকারীরা মুজাক্কিরের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। এসময় তার মোবাইল ফোন ফেরত চাইলে হামলাকারীরা তাকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছোঁড়ে। 
এসময় গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন মুজাক্কির।

এ ব্যপারে নোয়াখালী'র কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি জানান, সংঘর্ষের ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজ পুলিশ বাজার পরিচালনা পর্ষদের কাছ থেকে সংগ্রহ করেছে।

সংঘর্ষের সময় কারা অস্ত্র নিয়ে গুলি করেছিল সেটি পুলিশ পর্যালোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের দ্বন্দ্বে অস্থিরতা বিরাজ করছে। নিহত সাংবাদিক মুজাক্কিরকে নিয়ে দুপক্ষই রাজনীতি করার চেষ্টা করছে। পুলিশ এ ব্যাপারে সতর্ক আছে।

তিনি আরো বলেন, আব্দুল কাদের মির্জা ও মিজানুর রহমান বাদল উভয়ই নিহত মুজাক্কিরকে নিজেদের অনুসারী দাবি করছে  তবে যতদ্রুত সম্ভব তদন্ত করে আসামিদের গ্রেপ্তার করা হবে।

এদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নির্দেশ দিয়েছেন নিহত সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কিরের ঘটনা নিয়ে কেউ যেন রাজনীতি করতে না পারে। সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কিরের বড় ভগ্নিপতি হাওলাদার পুকুর পাড় মসজিদের খতিব মাওলানা আবু সাইয়েদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ওবায়দুল কাদের মুজাক্কিরের মৃত্যৃতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং যেকোনো প্রয়োজনে তাদের পাশে থাকবে।

বড়লেখায় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এর শুভ উদ্বোধন

বড়লেখায় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এর শুভ উদ্বোধন

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ক্রিকেট একাডেমি, বড়লেখা কর্তৃক আয়োজিত জাকির হোসেন জুমন টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এর শুভ উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বড়লেখা মোঃ শামীম আল ইমরান। টুর্নামেন্টে বিভিন্ন উপজেলার ১৬ টি টিম অংশগ্রহণ করছে।

নোবিপ্রবি'র সকল পরীক্ষা স্থগিত

নোবিপ্রবি'র সকল পরীক্ষা স্থগিত

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি: নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) চলমান সকল টার্মের পরীক্ষা পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।
আজ মঙ্গলবার(২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ ও প্রকাশনা দপ্তরের সহকারী পরিচালক ইফতেখার হোসাইন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি জানানো হয়।
শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্ট সকলকে স্থগিত পরীক্ষার সময়সূচি পরবর্তীতে জানিয়ে দেওয়া হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

দিনাজপুরে ধুমধামের সাথে শতবর্ষী বৃদ্ধ-বৃদ্ধার পুনঃবিয়ে

দিনাজপুরে ধুমধামের সাথে শতবর্ষী বৃদ্ধ-বৃদ্ধার পুনঃবিয়ে

মামুনুর রশিদ, দিনাজপুর প্রতিনিধি বরের বয়স শতবর্ষ ও কনের বয়স শতবর্ষ ছুঁই ছুঁই। এরপরও বিয়ের আয়োজনের ছিলো না কোন কমতি। বিয়ের নিমন্ত্রণ কার্ড থেকে শুরু করে সহ¯্রাধিক মানুষের তিন দিন ধরে ভোজনের আয়োজন। বিবাহ বাসরে ব্রাক্ষ্মন দিয়ে বিয়ে পড়ানো হয়েছে সনাতনী বেদমন্ত্র দিয়েই। নাচ-গান, বাদ্য-বাজনা আর সনাতন রীতিতে ধুমধামের সাথে বিয়ে। এরকমই এক বিরল বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে দিনাজপুরের বিরল উপজেলার পল্লীতে।  
দিনাজপুরের বিরল উপজেলার ভারত সীমান্ত সংলগ্ন গ্রাম দক্ষিন মেড়াগাঁও-এ প্রায় মাস খানেক ধরেই আয়োজন চলে শতবর্ষী এই বর কনের বিয়ের। এই আয়োজনের পর রোববার রাত ৮টায় বর আসেন গাড়ীতে চরে। যথারীতি পুজাপার্বনের মাধ্যমে বরকে নিয়ে বসানো হয় বিবাহ বাসরে এবং সাজিয়ে-গুজিয়ে তার পাশেই বসানো হয় কনেকে। এরপর ব্রাক্ষ্মন নিয়ে উচ্চারন করা হয় সনাতনী বেদমন্ত্র "যদিদং হৃদয়ং মম-তদিদং হৃদয়ং তব"। এভাবেই সনাতনী রীতিতে মালাবদলসহ সবরকম আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হয় বিয়ে।  
বর বৈদ্যনাথ দেবশর্মা। আর কনে তারই ৯০ বছর আগে বিয়ে করা স্ত্রী পঞ্চবালা দেবশর্মা। বিয়ের নিমন্ত্রণকার্ডে তিনি উল্লেখ করেন, ৯০ বছর আগে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয় এবং বিয়ের পঞ্চম পীড়ি অর্থ্যাৎ পঞ্চম প্রজন্ম পার হয়েছে। এ জন্যই ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী আবার এই বিয়ে। বংশধরদের মঙ্গলের জন্য এই বিয়ের আয়োজন বলে জানালেন বর নিজেই।
আর বয়সের ভারে ন্যুয়ে পড়া কনে জানালেন, ছোটবেলা বিয়ে সম্পন্ন হওয়ায় বিয়ে কি- তা তিনি বুঝেননি। কিন্তু এবার এই বিয়েতে বেশ আনন্দ পাচ্ছেন তিনি।
ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী যিনি বেদমন্ত্র দিয়ে বিয়ে পড়িয়েছেন, সেই ব্রাক্ষ্মনও জানান, এমন বিয়ে তিনি কখনই দেননি এবং দেখেননি। বিবাহ রেজিষ্ট্রারও জানান একই কথা।
ধর্মীয় রীতির পাশাপাশি ধুমধামের কোন কমতি ছিলো না বিয়েতে। ছিলো বাদ্য-বাজনা, নাচগান, সহ¯্রাধিক মানুষের প্রীতিভোজসহ সব আয়োজনের। পরিবারের সদস্যরাও এতে বেশ আনন্দিত।
আর প্রতিবেশী এবং দুরান্ত থেকে আসা আত্মীয় স্বজনরাও যথারীতি বেশ উপভোগ করেছেন এই বিয়ে অনুষ্ঠান।
এলাকার জনপ্রতিনিধিরা ধুমধামের সাথে ব্যাতিক্রমী এই বিয়ে অনুষ্ঠানের কথা উল্লেখ করে জানালেন, এরকম বিয়ে তারা কখনও দেখেননি। এমন বিয়ের অনুষ্ঠানে আসতে পেরে খুশী তারা।

পটিয়ার ছনহরা কৃষকের ৬ গরু চুরিঃ হতাশ দরিদ্র কৃষক

পটিয়ার ছনহরা কৃষকের ৬ গরু চুরিঃ হতাশ দরিদ্র কৃষক

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ছনহরা ইউনিয়ন ১ নং ওয়ার্ড কৃষকের গরু চুরি করেছে সংঘবদ্ধ চুরের দল।এঘটনায় মনির আহমদ ও আবদুর রাজ্জাক বাদী হয়ে পৃথক দুটি  পটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ে করেছে। অভিযোগ সুএে জানাযায় ২১ ফেব্রুয়ারী রাতে মনির আহমদ এর একটি তার ভাই রাজা মিয়ার ২টি গরু চুরি করে নিয়ে যায়।গত ১৫ ফেব্রুয়ারী কৃষক আবদুর রাজ্জাক এর তিনটি গরু রাতে চুরি সংগঠিত হয়েছে। এসব বিষয়ে পটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করলেও রহস্যজনক কারণে নীরব ভুমিকা পালন করছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।   বর্তমানে কৃষকের গরু চুরির ঘটনা চরম হতাশার মধ্যে দিন কাটছে এবং কান্না করছে। তাদের সম্পদ এ গরুগুলো এখন চুরি হওয়ায় তারা পথে বসার উপক্রম বলে জানান ১ নং ইউপি সদস্য জায়দুল হক। 

যশোরের এক নারী মাদক মামলায় দুই বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত আসামী বাড়িতেই সাজা ভোগ করবেন

যশোরের এক নারী মাদক মামলায় দুই বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত আসামী বাড়িতেই সাজা ভোগ করবেন

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরে মাদক মামলায় দুই বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত পঞ্চাষোর্ধ এক নারীকে কারাভোগের পরিবর্তে ৭ শর্তে বাড়িতে সাজাভোগের আদেশ দিয়েছেন আদালত। তবে দুই বছর তাকে শর্তগুলো পালনের পাশাপাশি সমাজসেবা অধিদপ্তরের প্রবেশন অফিসারের নজরদারিতে থাকতে হবে। সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারী) যশোরের যুগ্ম দায়রা জজ শিমুল কুমার বিশ্বাস ভিন্নধর্মী এ রায় দিয়েছেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত বৃদ্ধা আজিমন বেগম যশোর সদর উপজেলার পুলেরহাট কৃষ্ণবাটি গ্রামের মনির শেখের স্ত্রী।আদালতের ব্যতিক্রমী এ রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, সংশ্লিষ্ট আদালতের অতিরিক্ত এপিপি আয়ুব খান বাবুল।মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০০৯ সালের ২০ আগস্ট শার্শা থানার ত্রিমোনী নামক স্থান থেকে আজিমন বেগমকে ১০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর যশোরের কর্মকর্তারা।

এ তদন্ত শেষে তার বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিটও দেয়া হয়। সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় বিচারক আজিমন বেগমকে দুই বছরের দণ্ড দিয়েছেন। তবে ওই দণ্ড হাজতে নয় বরং বাড়িতেই তিনি থাকতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে তাকে সাতটি শর্ত পালন করতে হবে। শর্তগুলো হলো, সমাজসেবা অধিদপ্তরের প্রবেশন অফিসারের নজরদারিতে থেকে কোনো প্রকার অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারবেন না। সর্বত্র শান্তি বজায় রাখবেন এবং সকলের সঙ্গে সদাচারণ করবেন। আদালত অথবা আইন প্রয়োগকারী সংস্থা তাকে কখনো তলব করলে শাস্তি ভোগ করিবার জন্য প্রস্তুত হয়ে যথাস্থানে হাজির হবেন। কোনো প্রকার মাদক সেবন, বহন, সংরক্ষণ এবং সেবনকারী, বহনকারী ও হেফাজতকারীর সঙ্গে মেলামেশা বা চলাফেরা করতে পারবেন না। আদালত কর্তৃক প্রবেশন অফিসারের তত্ত্বাবধানে থেকে নিজের বাসস্থান ও জীবনধারণের উপায় সম্পর্কে অবহিত করবেন। এই সময়কালীন প্রবেশন অফিসারের লিখিত অনুমতি ব্যতিত নির্দিষ্ট এলাকার বাইরে যেতে পারবেন না।

পটিয়ায় দ্বিতীয় বাইপাস সড়ক নির্মাণের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

পটিয়ায় দ্বিতীয় বাইপাস সড়ক নির্মাণের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ- পটিয়া বাইপাস সড়কের ৫০ ফুট দূরত্বে দ্বিতীয় আরেকটি বাইপাস সড়ক নির্মাণের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে এলাকাবাসী।গতকাল (সোমাবার) সকাল ৯টায় বাইপাস সড়কের গিরি চৌধুরী বাজার প্রবেশ মুখে কচুয়াই গ্রামের প্রায় দুই শতাধিক হিন্দু সংখ্যালঘু পরিবারের সদস্য ও মুসলিম নারী-পুরুষেরা এই মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে। মানববন্ধন কর্মসূচীর পাশাপাশি বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কচুয়াই ইউনিয়ন আ'লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক উৎপল সরকার রাজু, এডভোকেট উত্তম কুমার দে, শিক্ষক বাবুল ভট্টাচার্য্য, ইউ,পি সদস্য বাবু সুনীল দে, মানববন্ধন সমন্বয়কারী কিশোর কুমার দে, বিপ্লব দে প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, পটিয়ায় প্রথমে যে বাইপাস সড়ক নির্মাণ করা হয় তাতে শতাধিক মানুষ ভিটে বাড়ী হারিয়েছে। উচ্ছেদ হয়েছে অনেকগুলো মসজিদ, মন্দির। যানজট ও দুর্ঘটনা নিরসনের লক্ষ্যে বাইপাস নির্মাণ করা হলেও প্রকৃত পক্ষে দুর্ঘটনা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের স্বার্থে এলাকার লোকজন ভিটে বাড়ী হারিয়ে তাদের অপূরণীয় ক্ষতি মেনে নিলেও পাশাপাশি কচুয়াই গ্রামের উপর দিয়ে জাইকা আরেকটি বাইপাস সড়ক নির্মাণ করলে শত বৎসরের পৈত্রিক বসত ভিটা হারিয়ে দুই শতাধিক পরিবার নিঃস্ব হয়ে যাবে। সেই সাথে অনেক গুলো মসজিদ, মন্দির, কবরস্থান, শ্মশান ধ্বংস হবে।
কচুয়াই ইউনিয়ন আ'লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক উৎপল সরকার রাজু বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের রোল মডেল। কিন্তু একটি স্বার্থন্বেষী কুচক্রী মহল তাদের আর্থিক ফায়দা লুঠার জন্য সরকারকে ভুল সিদ্ধান্ত দিয়ে জনগণ ও সরকারের লোকসান জনক কার্যক্রম চালাচ্ছে। তিনি পটিয়ার পুরাতন সড়কে সওজের জায়গা উদ্ধার করে সেখানে সড়ক উন্নয়নের দাবী জানান। এছাড়া নিরীহ সংখ্যালঘু লোকদের পৈতৃক বাড়ী ভিটা হারানো থেকে রক্ষা করার জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

শারীরিক প্রতিবন্ধী নাজমাকে হুইল চেয়ার দিলেন মেয়র আশরাফুল আলম লিটন

শারীরিক প্রতিবন্ধী নাজমাকে হুইল চেয়ার দিলেন মেয়র আশরাফুল আলম লিটন

ফজলুর রহমান, শার্শা প্রতিনিধিঃ (যশোর):ফেব্রুয়ারী ২২-০২-২০২১শারীরিক প্রতিবন্ধি বেনাপোল বড় আঁচড়া চেকপোষ্ট এলাকার বাসিন্দা অসহায় নাজমা খাতুন(৩৭) কে একটি হুইল চেয়ার দিলেন বেনাপোল পৌর মেয়র মোঃ আশরাফুল আলম লিটন। নাজমা শুকুর আলী ড্রাইভারের মেয়ে।
.
সোমবার(২২ ফেব্রুয়ারি) বিকালে বেনাপোলের বুকে অবস্থিত মেয়র আশরাফুল আলম লিটনের সর্ববৃহৎ কেন্দ্র বাণিজ্যিক "নিত্যহাট" প্রাঙ্গণ থেকে মেয়রের নিজ অর্থায়নে ক্রয় করা হুইল চেয়ারটি  অসহায় নাজমা খাতুনের পিতা-মাতার উপস্থিতিতে মেয়র আশরাফুল আলম লিটন হস্তান্তর করেন।
.
ড্রাইভার শুকুর আলী আবেগ নিয়ে বলেন "আমার মেয়ে নাজমা ৮ বছর বয়সে বাইসাইকেল থেকে পড়ে তার দুটি পায়ের শক্তি হারিয়ে ফেলে, অনেক চেষ্টা করেছি,অনেক অর্থ ব্যায় করেছি, কিন্তু তার পা-দুটি ভাল করতে পারিনি, হাটতে না পারায় তার জীবণ চলাচলে পরিবরের সকলকে সর্বক্ষণ সহযোগীতা করতে হয়, মেয়রের দেওয়া হুইল চেয়ারটি আমার মেয়ের পথচলায় প্রেরণা যোগাবে এবং নতুন দিগন্তের শুভসূচনা ঘটবে বলে আমি আশা প্রকাশ করি"। মেয়ের নিথর জীবন সচল করে তুলতে তিনি মেয়র মহোদয়ের অভুতপূর্ব সাহায্যের প্রশংসা করেন।
.
হইল চেয়ার হস্তান্তর কালীন সময় যারা উপস্থিত ছিলেন, শার্শা উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান-মেহেদী হাসান, ছাত্রলীগ শার্শা উপজেলা শাখা'র প্রচার সম্পাদক-এনামুল হক মুকুল, দৈনিক প্রতিদিনের কন্ঠ'র ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ও পৌর যুবলীগ আহবায়ক- সুকুমার দেবনাথ, বড় আঁচড়া গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা-ইসরাইল সর্দার,বড় আঁচড়া ৯ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক-আশাদুজ্জামান আশা,যশোর জেলা আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরামের সহ-সভাপতি- ইমদাদুল হক বকুল,যুবলীগ নেতা-পলাশ প্রমূখ।