পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে দিনব্যাপী চাকুরী মেলা

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে দিনব্যাপী চাকুরী মেলা

মিঠুন কুমার রাজ, পিরোজপুর প্রতিনিধিঃপিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে উপজেলা পর্যায়ে দিনব্যাপী চাকুরি মেলা অনুষ্ঠিতহয়েছে।
২৫ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ মাঠে অক্সফ্যামের আর্থিক সহযোগীতায়, রিকল ২০/২১ ও বেসরকারী উন্নয় সংস্থা ডাকদিয়ে যাই পিরোজপুরের আয়োজনে এই মেলা অনুষ্ঠিত হল।
মেলায় ১০ টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহন করেণ । রুপসী বাংলা উন্নয়ন সংস্থা, রাজ মিউজিক (বাংলালিংক), পপুলার লাইফ ইন্সুইরেন্স, সিবিও সংগঠন (ইন্দুরকানী), মায়েরদোয়া স্যানিটারী গ্রামীণফোন), একমি ল্যাবরেটরিজ লিঃ, খান কম্পিউটার,বিসমিল্লাহ স্যানিটারী, শামীম ষ্টোর, মৌ বিউটি পার্লার ও লেডিস কর্নার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার হুসাইন মুহাম্মদ আল মুজাহিদ  চেয়ারম্যান এ্যড, এম মতিউর রহমান,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড, এম মতিউর রহমান। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন রিকল ২০/২১ প্রকল্প সমন্নয়কারী আমিনুল ইসলাম,প্রেসক্লাব সভাপতি ও জেলা প্লাটফর্ম সভাপতি আলমগীর কবির মান্নু।
এসময় উপস্থিত ছিলেন রিকল  প্রকল্প ২০/২১ ফিল্ড সুপার ভাইজার হুমায়ুন কবির, দেবদাস ডাকুয়া প্রমুখ।

লালমনিরহাটে স্বামীকে কুপিয়ে জখম

লালমনিরহাটে স্বামীকে কুপিয়ে জখম

রশিদুল ইসলাম রিপন লালমনিহাট জেলা  প্রতিনিধিঃ আজ ২৫ ফেব্রুয়ারি, লালমনিরহাট সদর উপজেলার​, গোকুন্ডা ইউনিয়নে রাসেল নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে।পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রী খাদিজা বেগম ২৫ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার ভোরে এ ঘটনা ঘটিয়েছেন। দরজা ভেঙে গুরুতর আহত অবস্থায় রাসেলকে উদ্ধার করে আশপাশের লোকজন। আর খাদিজাকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূএে জানাযায়, গোকুন্ডা ইউনিয়নের খালিশা গ্রামের রাসেল ডিশের ব্যবসা করেন। পারিবারিক কলহের জেরে ২৫ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার ভোরে তাকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন তার স্ত্রীর খাদিজা। চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে দরজা ভেঙে রাসেলকে উদ্ধার করেন। তাকে প্রথমে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

রাসেলের সঙ্গে তিন বছর আগে খাদিজার বিয়ে হয়। এ দম্পতির ঘরে দুই বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। লালমনিরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহা আলম রাসেলের স্ত্রী খাদিজাকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।অপর দিকে রোগীর অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পিলখানায় বিডিআর ঘাতকদের ফাঁসি চাই : মোমিন মেহেদী

পিলখানায় বিডিআর ঘাতকদের ফাঁসি চাই : মোমিন মেহেদী

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ  নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী বলেছেন, স্বাধীনতার মান অক্ষুন্ন রাখতে পিলখানায় বিডিআর ঘাতকদের ফাঁসি চাই। নতুন প্রজন্মের রাজনীতি সচেতন নাগরিকরা ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে দেয়া সরকারের অঙ্গীকার বাস্তবায়নও প্রত্যাশা করছি।

২৫ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৩ টায় তোপখানা রোডস্থ কার্যালয়ে প্রেসিডিয়াম মেম্বার বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত '১ যুগেও বিডিআর বিদ্রোহের বিচার হয়নি, কিন্তু কেন?' শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। এসময় তিনি আরো বলেন, নতুন করে রক্তপাত চাই না, আর তাই দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির মধ্য দিয়ে ঘাতকদেরকে উদারণ হিসেবে ইতিহাসের পাতায় তুলে ধরার কাজটিও বর্তমান সরকার প্রধান শেখ হাসিনাকে করতে হবে। এসময় প্রেসিডিয়াম মেম্বার অধ্যাপক শুভঙ্গকর দেবনাথ,সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রী, রাকিব হাসান শাওন, রিয়াজ শিকদার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।  

সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মোজাক্কিরকে হত্যার প্রতিবাদে ময়মনসিংহে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা

সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মোজাক্কিরকে হত্যার প্রতিবাদে ময়মনসিংহে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা

আশিকুজ্জামান মিজান ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃনোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মোজাক্কিরকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় ময়মনসিংহ গাংগিনারপাড় প্রেসক্লাবের সামনে আজ ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ ইং রোজঃ বৃহস্পতিবার সকাল ১১.৪৫ মিনিটে বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি এর ময়মনসিংহ মহানগর ও জেলা কমিটির পক্ষ থেকে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত।

এ ছাড়াও গাংগিনারপাড় গোল চত্ত্বর প্রদক্ষিণ করে অলকা নদী বাংলার সামনে অবস্থান করে বক্তব্য প্রদান করা হয়।মানববন্ধনে তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানানো হয় ময়মনসিংহে। সেইসাথে সঠিক তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সবিনয় অনুরোধ জানানো হয় উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া পলাশ, ময়মনসিংহ জেলা কমিটির সহ সভাপতি জাকির হোসাইন, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম হোসাইন, দপ্তর সম্পাদক আবুল বাশার লিংকন, ত্রান ও পূনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদক সালাউদ্দিন উজ্জ্বল।ময়মনসিংহ মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, এছাড়াও ময়মনসিংহ বিভাগীয় সাংবাদিক সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আজাহরুল আলম, রবিউল আওয়াল রবি, রোকসানা আক্তার, আজিজুল ইসলাম, খোকন সাহা, আলাদীন সানী, নওমী জাহান নিঝুম, ইসমাইল হোসেন শাকিল প্রমূখ।

ইউএন ফুড সিস্টেম সামিট’র উপ জাতীয় সংলাপ শীর্ষক কর্মশালা

ইউএন ফুড সিস্টেম সামিট’র উপ জাতীয় সংলাপ শীর্ষক কর্মশালা

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধি   : ইউ এন ফুড সিস্টেম সামিট-২০২১ এর উপ জাতীয় সংলাপ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় তুফান কনভেনশন সেন্টারে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠিত এ কর্মশালায় জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কতর্ৃপক্ষ এর চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) মো. আব্দুল কাইউম সরকার। এসময় তিনি বলেন, 'খাদ্যে পুষ্টি নিশ্চিত এবং নিরাপদ খাদ্য সম্পর্কে জনসচেতনতা গড়ে তুলতে হবে। ক্ষতিকর রাসায়নিক ও কীটনাশক ব্যবহারে সচেতন হতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরাপদ খাদ্য আইন পাশ করেছেন। নিরাপদ খাদ্য আমাদের এ অর্জনের পেছনে বড় ভূমিকা রাখতে পারবে, কারণ নিরাপদ খাদ্যের মাধ্যমেই আমরা পাব অর্থনীতির চালিকাশক্তি এবং সুস্থ, সবল, কর্মঠ ও দক্ষ মানবসম্পদ। নিরাপদ খাদ্যের বিষয়টি বর্তমানে বেশ আলোচিত। নানাভাবে খাদ্যে ভেজাল ও কীটনাশক ব্যবহৃত হচ্ছে। মানুষ এ খাবার গ্রহণ করছে। পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন ধরনের স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছে। মানুষের সুস্থ জীবনের জন্য নিরাপদ খাদ্যের কোনো বিকল্প নেই।' কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আফজাল হোসেন। কর্মশালায় স্বগত বক্তব্য রাখেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের এফপিএমইউ'র গবেষণা পরিচালক মো. মাহবুবুর রহমান। ইউ এন ফুড সিস্টেমস সামিট বিষয়ক পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের এফপিএমইউ'র সহযোগী গবেষণা পরিচালক মোস্তফা ফারুক আল বান্না। বিএফএসএ বিষয়ক ভিডিও প্রদর্শন করেন বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কতর্ৃপক্ষ এর পরিচালক আবদুর রহমান।

কর্মশালায় দলীয় আলোচনা, প্রেজেন্টেশন ও উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এমএম আফজাল হোসেন, সাতক্ষীরার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. তানজিল্লুর রহমান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর (খামারবাড়ী) সাতক্ষীরা'র উপ পরিচালক মো. নুরুল ইসলাম, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এসএম আব্দুল্লাহ আল মামুন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার রুহুল আমিন, মেডিকেল অফিসার ডা. জয়ন্ত সরকার, মো. রোকনুজ্জামান, দৈনিক কালের চিত্র পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার আব্দুর রহমান প্রমুখ। কর্মশালায় এই অঞ্চলের খাদ্য ব্যবস্থার বর্তমান অবস্থা, খাদ্য ব্যবস্থার সম্ভাব্য চ্যালেঞ্জসমূহ এবং খাদ্য ব্যবস্থার চ্যালেঞ্জ থেকে উত্তরণের উপায় সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।  সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মন্দিরা গুহ নিয়োগী।

লোহাগড়া মা কবরে, বাবা জেলে, ছেলে তোয়ার ভরসা কোথায়?

লোহাগড়া মা কবরে, বাবা জেলে, ছেলে তোয়ার ভরসা কোথায়?

মো:আজিজুর বিশ্বাস,স্টাফ রিপোর্টার (নড়াইল) নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার মাকড়াইল গ্রামের তোয়ার মা করবে আর বাবা হত্যার মামলার আসামী হয়ে জেলের ঘানী টানছে। কিন্তু দেড় বছরের ছোট শিশু ছোট্ট তোয়ার  ঠিকানা কি?
অভিযোগ সূত্রে জানা যায় গত ৪ বৎসর আগে নড়াইল জেলার লোহাগড় উপজেলার মাকড়াইল গ্রামের তবিবার রহমানে ছেলে তুরস্ক প্রবাসী তোয়ার বাবা ফরিদ মৃধা (৩৫)'র  সঙ্গে নড়াইল জেলার সদর উপজেলার যথুনাথপুর গ্রামের নুর জালাল মোল্যার মেয়ে তন্নী  খানমের বিয়ে হয়েছিল। গত ২৪ শে আগষ্ট শিশু তোয়ার মা তন্নী হঠাৎ অসুস্থ  হয়ে পড়লে তোয়ার বাবা তোয়ার মামা বাড়ীতে খবর দেয়। তোয়ার মামা রিয়াজ ও ফরিদ খবর শুনে তন্নীর স্বামীর বাড়ী মাকড়াইলে আসে। তন্নীকে দেখে শুনে চিকিৎসা  করার জন্য তাদের কাছে থাকা ব্যাগ থেকে স্যালাইন ও ইনজেকশন  তার শরীরে প্রয়োগ করলে তার শারীরিক অবনতি হতে থাকে।

 সে সময়ে পরিবারের সকলে মিলে তন্নীকে এ্যাম্বলেন্স  যোগে   নড়াইল সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে (তন্নী) কে মৃত ঘোষনা করেন।
তন্নীর মৃত্যু ঘোষনার পর উভয় পরিবারের সমঝোতায় তোয়ার মা তন্নীকে তার বাবার বাড়ি যধুনাতপুর গ্রামে দাফন করা হয়।

কিন্তু গত ২৫/০১/২১ ইং তারিখে তোয়ার মামা (মৃত তন্নির বড় ভাই) ফরিদ আশফাক বাদী হয়ে নড়াইল আমলী আদালতে ফরিদ মৃধা সহ ৫ জন কে আসামী একটি হত্যা মামলার আবেদন দাখিল করেন। আদালত আবেদন আমলে নিয়ে লোহাগড়া থানায় ৩০২/৩৭ ধারায় এফআইআর করার আদেশ দেন।


মৃত্যুর ৪ মাস পর তোয়ার মা তন্নীকে হত্যা করা হয়েছে বলে তোয়ার মামা ফরিদ আশফাক বাদী হয়ে মামলা করেন । মজার ঘটনা হলো তন্নীর মৃত্যুর ৪ দিন পর উভয় পক্ষ নোটারী পাবলিক এর মধ্যমে একটি আপোশ নামা করেন সেখানে উল্লেখ্য আছে  তোয়ার মা তন্নী  স্টোক করে মারা গেছেন।  নোটারী পাবলিক রেজিঃ নং-৩০০ তাং৩১/০৮/২০২০। তন্নী হত্যার মামলার স্বাক্ষীদের সাথে কথা হলে তারা জানান, তন্নী খুন হয়েছে কিনা আমাদের জানা নাই তন্নীকে অসুস্থ অবস্থায় তার ভাইদের উপস্থিতে হাসপাতালে নেওয়া হয়।
সকল সত্যকে আড়াল করে তোয়ার মামা ফরিদ আশফাক নিজ স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য তোয়ার বাবা ফরিদ মৃধা সহ ০৫ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা  দায়ের করেন। 

এই মামলার প্রধান আসামী তোয়ার বাবা এবং তোয়ার একমাত্র ভরসা ফরিদ মৃধাকে লোহাগড়া থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরন করেছে। 

ফুটফুটে  দেড় বছরের শিশু কন্যা তোয়া এখন হতাশার দিন গুনছে কখন ফিরবে তার মা তন্নী ও বাবা ফরিদ। তোয়া তো জানে না তার মা কখনো আসবে না, কিন্তু তোয়ার শেষ আশ্রয় তার বাবা ও ফিরে আসবে না তাকে কি মিথ্যা মামলার আসামী হয়ে টানতে হবে জেলের ঘানি। তাহলে তোয়ার ঠিকানা কি?

হাতীবান্ধায় ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীর আত্মহত্যা

হাতীবান্ধায় ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীর আত্মহত্যা

মোঃ রাশেদুল ইসলাম রাশেদ,স্টাফ রিপোর্টার: লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের পশ্চিম সারডুবী এলাকায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে।মিষ্টি খাতুন (১২) নামের ওই স্কুলছাত্রী পশ্চিম সারডুবী এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে এবং বড়খাতা উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে বাড়িতে ঘরের সিলিংয়ে ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে সে।এলাকাবাসী জানান, জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী তার শ্বশুরসহ হাতীবান্ধা যান। দুপুরে বাড়িতে ছোট বোনের সাথে ছিল মিষ্টি। ঠিক কি কারণে সে আত্মহত্যা করেছে তা কেউ বলতে পারছেন না।

হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি এরশাদুল আলম বলেন, খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে।

মোংলায় কোষ্টগার্ডের অভিযানে ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক

মোংলায় কোষ্টগার্ডের অভিযানে ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা: মোংলায় কোষ্টগার্ডের অভিযানে ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। ২৪ ফেব্রুয়ারি বুধবার রাতে সুন্দরবনের বেরীবাধ এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদক ব্যাবসায়ী আবু হুরাইরাকে ইয়াবাসহ আটক করা হয়।

কোষ্টগার্ড জানায়, মোঃ আনোয়ার হোসেন'র ছেলে আবু হোরায়রা ইয়াবা বিক্রি করছে এমন গোপন সংবাদ পেয়ে ওই এলাকায় অভিযান চালায় মোংলা কোষ্টগার্ডের'র একটি অভিযানকারী দল। বুধবার রাতে সুন্দরবনের বেরীবাধ এলাকায় পৌঁছালে কোষ্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে ইয়াবাসহ অন্যরা পালিয়ে গেলেও ধাওয়া করে আবু হোরায়রাকে আটক করতে সক্ষম হয়। পরে তার দেহ তল্লাশী করে জামার পকেটে থাকা ২৪ পিচ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। আটক আবু হোরায়রা সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর থানার কৈখালী গ্রামের মোঃ আনারুল হোসেন'র পুত্র।

কোষ্টগার্ড আরো জানায়, মাদক ব্যাবসায়ী আবু হোরায়রা নিজ স্বার্থ হাসিলের জন্য উক্ত মাদক দ্রব্য ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মাদক সেবনকারীর কাছে বিক্রয় করবে বলে স্বীকার করে, যা আমাদের চারপাশের যুবসমাজকে ধীরে ধীরে অনেক বড় ক্ষতির দিকে ধাবিত করছে। পরবর্তীতে জব্দকৃত ইয়াবা ও আটককৃত মাদক ব্যবসায়ীকে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

বাংলাদেশ কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের গোয়েন্দা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার ইমতিয়াজ আলম জানান, কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের আওতাভুক্ত এলাকা সমূহে আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ, জননিরাপত্তার পাশাপাশি দস্যু দমন,অবৈধ অনুপ্রবেশ ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন রোধে কোস্ট গার্ডের জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করে নিয়মিত অভিযান অব্যাহত আছে এবং ভবিষ্যতেও তা থাকবে বলে জানায় কোষ্টগার্ডের এ কর্মকর্তা।

মোংলা বন্দরের উন্নয়ন প্রকল্প ও উন্নয়ন কাজ এগিয়ে চলেছে দ্রুত গতিতে

মোংলা বন্দরের উন্নয়ন প্রকল্প ও উন্নয়ন কাজ এগিয়ে  চলেছে দ্রুত গতিতে

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা:     
মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা, ওএসপি, এনপিপি, আরসিডিএস, এএফডব্লিউসি, পিএসসি যোগদানের পর ধারাবাহিকভাবে বন্দরের প্রকল্পসমূহ সরেজমিনে পরিদর্শন শুরু করেন। তিনি সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট, ভিটিএমআইএস প্রকল্প, কন্টেইনার ইয়ার্ড নির্মাণ কাজ এবং মোংলা বন্দরের আওতাধীন মেইন সড়কের মেরামত কাজ সরেজমিনে পরিদর্শন করেন ।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, ''মোংলা বন্দরের জন্য সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপন প্রকল্প যা মোংলা বন্দরের নিজস্ব পানির চাহিদা, বৈদেশিক জাহাজ, মোংলা বন্দরে গড়ে উঠা বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানসহ মোংলা বন্দরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সুপেয় পানি সরবরাহের মাধ্যমে বন্দর ব্যবহারকারীদের উত্তম সেবা প্রদান করে দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধিতে অবদান রাখবে। 

ভিটিএমআইএস  প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে আইএমও রেগুলেশন অনুযায়ী সোলাস ও আইএসপিএস কোড অনুসৃত হবে,বন্দরে আগত দেশে বিদেশি জাহাজ নিরাপদ চলাচল ও দক্ষ ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত হবে, বন্দরে আগত জাহাজের যাবতীয় তথ্যাদি পূর্বাহ্নে জানা সম্ভব হবে। ফলে নিরাপত্তা ঝুঁকি হ্রাস, বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে এবং বন্দর ব্যবহারকারীগণ মোংলা বন্দর ব্যবহারে আরও আগ্রহী হবে ও বন্দরে অধিক সংখ্যক জাহাজ হ্যান্ডলিং এর পাশাপাশি রাজস্ব আয়ও বৃদ্ধি পাবে।


এছাড়াও বন্দরের বর্তমানে কন্টেইনার ইয়ার্ড নং-৮ এর নির্মাণ কাজ ইতোমধ্যে ৯০% কাজ শেষ হয়েছে। চলতি বছরেই এ নির্মাণ কাজ শেষ হবে ও উক্ত ইয়ার্ডে ১০৫০টি কন্টেইনার রাখা যাবে এবং মোংলা বন্দরের আওতাধীন মেইন সড়কের মেরামত কাজে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে দ্রুত টেকসইভাবে কাজ শেষ করার জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগকে নির্দেশনা প্রদান করেন.

সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন হত্যাকারীদের শাস্তির দাবিতে কোটচাঁদপুরে মানববন্ধন

সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন হত্যাকারীদের  শাস্তির দাবিতে  কোটচাঁদপুরে মানববন্ধন

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, খুলনা ব্যুরো প্রধানঃ বার্তাবাজার এর নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি বোরহান উদ্দিন মুজাক্কিরকে নির্মমভাবে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদ ও দোষিদের গ্রেফতার ও শাস্তি এবং বিচারের দাবিতে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার সকল কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দদের উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার  (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় কোটচাঁদপুর পৌর শহরের পায়রা চত্বরে প্রায় ঘন্টাব্যাপী এ কর্মসূচীর আয়োজন করে স্থানীয় সাংবাদিকরা। এতে ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে উপজেলার কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা বক্তব্য রাখেন। 

সে সময় উপস্থিত ছিলেন,  দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম,  দৈনিক কালের কন্ঠ পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি কাজী মৃদুল,  দৈনিক সংবাদ পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি অশোক দে, দৈনিক যায়যায়দিন পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি আলমগীর খান,   দৈনিক তথ্যনুসন্ধান পত্রিকার ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, সাংবাদিক ইসমাইল, দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি মঈন উদ্দিন, দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি এস, এম, রায়হান উদ্দিন, দৈনিক মাথাভাঙ্গা পত্রিকা উপজেলা প্রতিনিধি, সুব্রত সরকার, দৈনিক ভোরের কাগজ, উপজেলা প্রতিনিধি শেখ ইসমাইল হোসেন, দৈনিক দিনকাল প্রতিনিধি, ঠান্ডু মিয়া
দৈনিক ভোরের সময় পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধিঃ সোহেল চৌধুরী,। সিএন বাংলা টিভির উপজেলা প্রতিনিধিঃ মোঃ রমজান আলী,
দৈনিক নবচিত্র পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি ও বর্তমান ঝিনাইদহ টিভির বিশেষ প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম,

দৈনিক ভোরের চেতনা পত্রিকার প্রতিনিধি শামীম রেজা, দৈনিক প্রতিদিনের কথা পত্রিকার  উপজেলা প্রতিনিধি আব্দুর রউফসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

এসময় বক্তারা, সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার বলে জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান।
এসময় বক্তারা, সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার বলে জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান।

সাংবাদিক হত্যার পরিদর্শন করেন পিবিআই কর্মকর্তারা

সাংবাদিক হত্যার পরিদর্শন করেন পিবিআই কর্মকর্তারা

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের গোলাগুলিতে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির নিহতের ঘটনায় উদ্ধারকৃত আলামত পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার দায়িত্ব পেয়ে ঘটনাস্থলও পরিদর্শন করেছেন পিবিআই কর্মকর্তারা।

বুধবার দুপুরে পিবিআই নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান মুন্সীর নেতৃত্বে একটি তদন্ত দল ওই এলাকা পরিদর্শন করেন। এ সময় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর মোস্তাফিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

পিবিআইয়ের তদন্ত দলটি চাপরাশিরহাট পূর্ববাজারের ঘটনাস্থল এবং নিহতের বাড়িতে গিয়েছেন। তারা নিহতের পরিবারের সদস্য, স্থানীয় লোকজন এবং সংঘর্ষের সময় কর্মরত পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছেন। 

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহিদুল হক রনি জানান, ঘটনার পর উদ্ধারকৃত মুজাক্কিরের ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোন, একটি ভিডিও ক্যামেরা (মেমোরি কার্ড ছাড়া), একটি মানিব্যাগ, একটি ওটিজি কর্ট, বাজারের সিসিটিভি ফুটেজসহ সব আলামত বুধবার দুপুরে পিবিআইতে হস্তান্তর করা হয়েছে।  

পিবিআই নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান মুন্সী জানান, মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে মামলাটির প্রতিবেদন দেওয়ার চেষ্টা করব।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার উপজেলার চাপরাশিরহাট পূর্ববাজারে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোটভাই বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশও কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ও শটগানের গুলি ছোড়ে।

ঘটনার ছবি ও ভিডিও ধারণ করতে গিয়ে ত্রিমুখী সংঘর্ষের মুখে পড়ে গুলিবিদ্ধ হন সাংবাদিক মুজাক্কিরসহ ৭-৮ জন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাত ১০টা ৪৫ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান মুজাক্কির। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার সকালে নিহতের বাবা নোয়াব আলী মাস্টার বাদী হয়ে অজ্ঞাত একাধিক ব্যক্তিকে আসামি করে কোম্পানীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই রাতেই মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য পিবিআইতে হস্তান্তর করা হয়।

পটিয়ার ধাউরডাঙ্গায় প্রতিপক্ষের সন্রাসী হামলায় নগর যুবলীগ নেতা আহত

পটিয়ার ধাউরডাঙ্গায় প্রতিপক্ষের সন্রাসী হামলায় নগর যুবলীগ নেতা আহত

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ছনহরা ইউনিয়নে ৯ নং ওয়ার্ড  প্রতিপক্ষের সন্রাসী হামলায় নগর যুবলীগ নেতা  মোঃ মঈনুদ্দিন মুহাম্মদ মঈনুদ্দিন গুরুত্বর আহত হয়েছে মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৩ ফেব্রুয়ারী রাত ১১ টার সময় নজু মিয়া স্কুল সংলগ্ন এলাকায়। এঘটনায় ধাউরডাঙ্গা এলাকায় এজলাস মাঝির বাড়ির মোঃ নাছির এর পুএ বাদী হয়ে মোঃ ফজল করিম,মোঃ জাহেদ,তৌহিদুল ইসলাম, মোঃ সিরাজ, মোঃ নয়ন এর বিরুদ্ধে পটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। আহত মঈনুদ্দিন কে স্থানীয়রা উদ্ধার করে পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করে। মঈনুদ্দিন এর মাথায় চুরির আঘাতে গুরুত্বর আহত হয়েছে। থানার দায়েকৃত অভিযোগ সুএে জানাযায়, ২৩ ফেব্রুয়ারী মঈনুদ্দিন তাদের দোকান থেকে বাড়িতে ফেরার পথে প্রতিপক্ষরা পূর্বপরিকল্পিত ভাবে মঈনুদ্দিন এর পথরোধ করে নির্জন স্থানে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এর এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। প্রতিপক্ষরা টানাহেঁচড়া করে নির্জন স্থানে নিতে না পারলে এলোপাতাড়ি দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে এবং মাথায় চুরি মারে। এতে মঈনুদ্দিন এর মাথায় গুরুত্বর কাটা রক্তাক্ত জখম করে। মঈনুদ্দিন জানান, 

প্রতিপক্ষরা স্থানীয় বিএনপি'র ক্যাডার ভিত্তিক রাজনীতির সাথে জড়িত। পুর্বপরিকল্পনা করে তাকে হত্যার চেষ্টা করে। মঈনুদ্দিন এ ব্যাপারে পটিয়া পুলিশ প্রশাসন ও জাতীয় সংসদের আলহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরীর সুদৃষ্টি কামনা করেছে ন্যায় বিচার পাওয়ার জন্য। 

হালাল ছরোয়ার হোসাইন

হালাল ছরোয়ার হোসাইন

হালাল উপার্জনে,
      শান্তি আনে প্রানে।
এটা তো সবাই জানে,
     কিন্তু কয়জনে বলো মানে?
মানতো যদি সবাই,
     তবেকি আমরা ভাই,
  গরিবের চাল চুরি করে খাই?
মানুষ আছে ভাই,
      মনুষ্যত্ব যে নাই।
মানুষের মতো মানুষ বলো, 
      কোথায় গেলে পাই?
পরের জন্য কাদে যার মন,
      এমন মানুষ খুজি সারাক্ষণ। 
ইবাদত কবুল হবেনা ভাই,
      উপার্জন যদি না হয় হালাল।
দান সদকায় বৃদ্ধি পায়,
        দানকারীর মাল।
অনাহারে থাকে যদি আমার প্রতিবেশী, 
    একটু দানেই আসবে ফিরে তাদের মুখের হাসি।
প্রতিবেশীর হাসি,
     আসুন আমরা ভালবাসি।

 লেখক পরিচতি:উপ সহকারি কৃষি কর্মকর্তা,নাগরপুর।

সাংবাদিক বোরহান উদ্দীনের খুনীদের গ্রেফতারের দাবীতে সাপাহার মডেল প্রেসক্লাবের মানববন্ধন!

সাংবাদিক বোরহান উদ্দীনের খুনীদের গ্রেফতারের দাবীতে সাপাহার মডেল প্রেসক্লাবের মানববন্ধন!

রহমতউল্লাহ  আশিকুর জামান নুর, নওগাঁ,প্রতিনিধি: নোয়াখালীর চাপরাশির হাটে দু পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নিহত বার্তাবাজারের সাংবাদিক বোরহান উদ্দীন মুজাক্কির'র খুনীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও শাস্তির দাবীতে সাপাহার মডেল প্রেসক্লাবের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহষ্পতিবার বেলা ১০টার দিকে সাপাহার মডেল প্রেসক্লাবের আয়োজনে প্রেসক্লাব কার্যালয়ের  সামনে উক্ত মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় সাপাহার মডেল প্রেসক্লাবের সভাপতি মনিরুল ইসলামের নের্তৃত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কারের সঞ্চালনায় ঘন্টাকাল ব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচীতে  তরুণ সাংবাদিক বোরহান উদ্দীনের খুনীদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির জোর দাবী জানানো হয়। 

উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে সাংবাদিকের খুনীদের গ্রেফতার ও শাস্তির জোর দাবী তুলে বক্তব্য প্রদান করেন মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটি সাপাহার উপজেলা শাখার সভাপতি শাহরয়িার রাসেল, মডেল প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি আমজাদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক রতন মালাকার, ছাত্রলীগ কর্মী অপু রাসেল সহ অত্র সংগঠনের অন্যান্য সদস্যগন।
এসময় বক্তারা বলেন, বোরহান উদ্দীনের খুনীদের দ্রুত গ্রেফতার ও আইনের আওতায় না আনা হলে পরবর্তীতে  এ ধরণের আন্দোলন অব্যহত থাকবে।