ঢাবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে নীল দলের জয়

ঢাবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে নীল দলের জয়

নিউজ ডেস্কঃ করোনা পরিস্থিতির কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াতপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল অংশগ্রহণ না করায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন নীল দল জয়ী হয়েছে। রোববার রাত আটটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি নির্বাচনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক ড. জাকির হোসেন ভূঁইয়া নীল দলের প্রার্থীদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী ঘোষণা করেন। সভাপতি পদে অধ্যাপক ড. মো. রহমত উল্লাহ, সহ-সভাপতি পদে অধ্যাপক ড. সাবিতা রেজওয়ানা চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ পদে অধ্যাপক ড. মো. আকরাম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক পদে অধ্যাপক ড. নিজামুল হক ভূইঁয়া এবং যুগ্ম-সম্পাদক পদে অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রহিম জয়ী হয়েছেন।

এছাড়া ১০টি সদস্য পদে অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান, অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম, অধ্যাপক ড. এজেএম শফিউল আলম ভুইয়া, অধ্যাপক ড. ইসতিয়াক মঈন সৈয়দ, অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. আমজাদ আলী, অধ্যাপক ড. চন্দ্রনাথ পোদ্দার, অধ্যাপক ড. আবু সারা শামসুর রউফ, অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আব্দুল মঈন এবং অধ্যাপক ড. নিসার হোসেন জয়ী হয়েছেন। শিক্ষক সমিতির নির্বাচন ৩০শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ১৫ টি পদে আর কেউ প্রার্থীতা না করায় নীল দল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়। নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফলাফল সোমবার বিকেল ৪ টায় ঘোষণা করা হবে।

তথ্যের উৎসঃ মানব জমিন

শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ ও হাইজিন সামগ্রী বিতরণ

শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ ও হাইজিন সামগ্রী বিতরণ
মহান বিজয় দিবস উদযাপন
এস.এম অলিউল্লাহ  (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি:ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে দায়েমী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা এবং শিক্ষা উপকরণ ও হাইজিন সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। রবিবার দুপুরে উপজেলার ইব্রাহিমপুর সূফি আজমত উল্লাহ (রঃ) এতিমখানা প্রাঙ্গণে এই আলোচনা সভা এবং শিক্ষা উপকরণ ও হাইজিন সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

দায়েমী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ ফয়েজী মোহাম্মদী আহম্মদ উল্লাহ এর সভাপতিত্বে ও মাদ্রাসার আরবি প্রভাষক আনোয়ার হোসাইনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ একরামুল ছিদ্দিক। 

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমাজসেবা অফিসার পারভেজ আহমেদ, নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিনুর রশিদ, ইব্রাহিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু মোছা, ইব্রাহিমপুর ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মুফতি মোঃ এনামুল হক কুতুবী, ইব্রাহিমপুর ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান নোমান চৌধুরী প্রমুখ। 

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন মাদ্রাসার সহকারী অধ্যাপক মোঃ ইব্রাহীম খলিল, দায়েমী ফাউন্ডেশনের প্রকল্প পরিচালক মোঃ আতাউল্লাহ, সাংবাদিক জালাল উদ্দিন মনির, মোস্তাক আহম্মেদ উজ্জল, কামরুল হাসান, সফর মিয়া, কাউছার আলম, মনির হোসেন সহ ফাউন্ডেশনের সদস্য ও মাদ্রাসার অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ।

আমন্ত্রিত অতিথিরা এতিমখানার শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ ও হাইজিন সামগ্রী বিতরণ করেন। শিক্ষা উপকরণ ও হাইজিন সামগ্রীর মধ্যে ছিলো খাতা, কলম, পেন্সিল, ইরেজার, শার্পনার, বডি সোপ, লন্ড্রি সোপ, তেল, টুথ পেস্ট, টুথ ব্রাশ, লিপজেল।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ একরামুল ছিদ্দিক দায়েমী ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন কার্যক্রম ও এতিমখানার শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ ও হাইজিন সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে মহান বিজয় দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরেন এবং শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনামূলক পরামর্শ দেন।

পীরগঞ্জ পৌর নির্বাচন: আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইকরামুল হককে দল থেকে অব্যাহতি

পীরগঞ্জ পৌর নির্বাচন: আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইকরামুল হককে দল থেকে অব্যাহতি
বিদ্রোহী প্রার্থী ইকরামুল হক

কলিন চন্দ্র (ইতু) রায়,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:
ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বাইরে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা ইকরামুল হককে আওয়ামী লীগের সব পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মু. সাদেক কুরাইশী ও সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার রায় স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তাঁকে এই অব্যাহতি প্রদান করা হয়।

চিঠি সূত্রে জানা যায়, পীরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র কশিরুল আলমের বিরুদ্ধে 'বিদ্রোহী প্রার্থী' হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেয়ার অভিযোগ ইকরামুল হকের বিরুদ্ধে। একারণে ইকরামুল হককে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের ৪৭ ধারার ১১ উপধারা মোতাবেক দলীয় সব পদ থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ানুল হক বিপ্লব এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নারিকেল গাছ মার্কায় পীরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন ইকরামুল হক। আগামী ২৮শে ডিসেম্বর পীরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা পাঁচ লাখ চাড়ালো

করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা পাঁচ লাখ চাড়ালো

নিউজ ডেস্কঃ করোনাভাইরাসে সংক্রমিতের সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়িয়েছে দেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমিতের সংখ্যা । গত ২৪ ঘণ্টায় (আজ রোববার সকাল ৮টা পর্যন্ত) আরও ১ হাজার ১৫৩ করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন।  মারা গেছে ৩৮ জন। এ পর্যন্ত দেশে মোট সংক্রমিত হয়েছে ৫ লাখ ৭১৩ জন।  এখন পর্যন্ত করোনায় দেশে মারা গেছে ৭ হাজার ২৮০ জন।

আজ রোববার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় অ্যান্টিজেনভিত্তিক পরীক্ষাসহ মোট ১২ হাজার ৯০০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৮ দশমিক ৬৬ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯২৬ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৩৭ হাজার ৫২৭ জন।গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। ক্রমেই মহামারি আকারে সংক্রমণ বিশ্বের প্রায় সব দেশে ছড়িয়ে পড়ে। বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনা শনাক্তের কথা জানায় সরকার।

প্রথম রোগী শনাক্তের তিন মাস পর ১৮ জুন তা এক লাখ ছাড়িয়ে যায়। এরপর এক মাসের ব্যবধানে ১৮ জুলাই শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ায় দুই লাখে। এর পরের এক লাখ রোগী শনাক্ত হয় ১ মাস ৯ দিনে, ২৬ আগস্ট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ছাড়ায় ৩ লাখ। গত ২৬ অক্টোবর শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৪ লাখ ছাড়িয়ে যায়। আর শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৫ লাখে পৌঁছাতে সময় লাগে ৫৫ দিন।


মাস দুয়েক সংক্রমণ নিম্নমুখী থাকার পর গত নভেম্বরের শুরুর দিক থেকে শনাক্তের হারে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা শুরু হয়। তবে এক সপ্তাহ ধরে দেশে করোনা সংক্রমণের হার কম দেখা যাচ্ছে। টানা চার দিন শনাক্তের হার ১০ শতাংশের কম থাকার পর গতকাল শনিবার শনাক্তের হার ১০ শতাংশ ছাড়িয়েছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ছিল ৮ দশমিক ৬৬ শতাংশ।কোভিড-১৯-এ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করা হয় গত ১৮ মার্চ। শুরুর দিকে প্রায় এক মাস মৃত্যু ছিল অনিয়মিত ঘটনা। ৪ এপ্রিল থেকে গতকাল পর্যন্ত প্রতিদিন দেশে করোনায় মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। মে মাসের মাঝামাঝি থেকে কখনো মৃত্যু টানা কমতে দেখা যায়নি। মৃত্যুর সংখ্যা নিয়মিত ওঠানামা করতে দেখা গেছে। গতকাল করোনায় মারা যান ২৫ জন।

 টিকা না আসা পর্যন্ত সংক্রমণ প্রতিরোধের মূল উপায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা বলে মন্তব্য করেছেন জনস্বাস্থবিদরা । বিশেষ করে বাইরে বের হলে মুখে মাস্ক পরা শতভাগ নিশ্চিত করা, কিছু সময় পরপর সাবান-পানি দিয়ে হাত ধোয়ার বিধি মেনে চলতে হবে বলে তারা হুশিিয়ারী করেছেন।  

পুলিশের হয়রানি চাঁদাবাজির প্রতিবাদে বিক্ষোভ

পুলিশের হয়রানি চাঁদাবাজির প্রতিবাদে বিক্ষোভ


পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ-চট্টগ্রামের পটিয়ায় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে পরিবহণ থেকে ট্রাফিক পুলিশের ব্যাপক চাঁদাবাজি, ট্রাফিক পুলিশের ব্যক্তিগত কাজে গাড়ি ব্যবহার, ডিউটির নামে বিভিন্ন জেলা উপজেলায় নিয়ে ৫/৭দিন আটকে রাখা ,হয়রানিমূলক ১৫ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে মামলা দেয়াসহ বিভিন্ন অনিয়ম নির্যাতনের প্রতিবাদে পরিবহন শ্রমিকেরা বিক্ষোভ করেছেন। ২০ ডিসেম্বর রবিবার  সকাল ১১টায় পটিয়া হাসপাতাল গেইটস্থ হালকা মোটরযান চালক শ্রমিক ইউনিয়ন পটিয়া উপজেলার সংগঠন কার্যালয়ে সংগঠনের সভাপতি নাজিম উদ্দীনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ সভাপতি মোস্তফা কামাল, সাধারণ সম্পাদক ও রিভিউ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা পটিয়া উপজেলার দপ্তর সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ, বক্তব্য রাখেন শ্রমিক নেতা সরোজ বড়ুয়া, মোঃ বাবুল, মোঃ  বশর, মোঃ সেলিম, মোঃ খোকন, মো. কামাল, মুহাহাম্মদ লেদু, বাবুল বড়–য়া, মো. টিপু, জয় বড়–য়া, মো. মঞ্জু, মো. রিংকু, মোহাম্মদ ছালাম, মো. খালেক, মো. খোকন, নুরুল কবির বাচা, অসীম বাবু, জানে আলম, মো. আজাদ, মো. সেলিম, মো. জাহাঙ্গীর, মো. সুমন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। পরিবহন শ্রমিকদের অভিযোগ ট্রাফিক পুলিশের মাসের মধ্যে একাধিকবার ডিউটির নামে চট্টগ্রাম জেলার বাইরে বিভিন্ন জেলায় নিয়ে ৫/৮দিন আটকে রেখে  কোন টাকা দেয়া দুরের কথা গাড়ির তেল, চালককে খাবার পর্যন্ত না দেয়ার অভিযোগ করেন। এসময় পটিয়ার হাইচ মাইক্রো চালক শ্রমিকেরা ট্রাফিক পুলিশের বেপরোয়া চাঁদাবাজি বন্ধ ও হয়রানি বন্ধ করতে চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি ও পুলিশের মহাপরিদর্শক ও মাননীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন

অষ্টম বর্ষপূর্তি পালন না করে খাদ্য সামগ্রী প্রদানে নতুনধারা

অষ্টম বর্ষপূর্তি পালন না করে খাদ্য সামগ্রী প্রদানে নতুনধারা


প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ করোনার কারণে অষ্টম বর্ষপূর্তি পালন না করে খাদ্য সামগ্রী প্রদানে নতুনধারার রাজনীতিকগণ ব্যস্ত থাকবেন। ৩০ ডিসেম্বর ২০১২ সালের আত্মপ্রকাশের দিনটিকে ভিন্নভাবে স্মরণিয় করে রাখতে এ উদ্যেগ নেয়া হয়েছে। নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী ২০ ডিসেম্বর বিকেল ৪ টায় অনুষ্ঠিত 'মহামারি করোনা : নতুনধারা বর্ষপূর্তি পালন করবে না' শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন। একই সাথে প্রেসিডিয়াম মেম্বার মরহুম লায়ন ডা. আবুল কাশেম ভূঁইয়া, পাগলমন খ্যাত গানের গীতিকার আহমেদ কায়সার ও আনোয়ার সাইয়্যেদীর স্মরণে দোয়া ও আলোচনা সভার সিদ্ধান্তর কথাও জানান নতুনধারার চেয়ারম্যান।
 
এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম মেম্বার বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক শুভঙ্কর দেবনাথ, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রী, যুগ্ম মহাসচিব প্রকৌশলী লিলি চৌধুরী, স্মৃতি রাণী দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক লিটন দ্রং প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে মোমিন মেহেদী সহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নেতাদের পাশাপাশি বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের অংশ গ্রহণে নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবি আত্মপ্রকাশ করে। রেড র‌্যালীর মধ্য দিয়ে আত্মপ্রকাশের পর থেকে ক্রমশ স্বাধীনতার পক্ষের প্রকৃত তরুণদেরকে ঐক্যবদ্ধ করে ৪৪ জেলা, ১০২ উপজেলা কমিটি সহ ১৬৭ টি কমিটি গঠন করেছে ছাত্র-যুব-জনতার রাজনৈতিক মেলবন্ধন নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবি। সকল শর্ত মেনে নিবন্ধনের আবেদন করার পর নিবন্ধন না দেয়ায় প্রধান নির্বাচন কমিশনারের পদত্যাগের দাবিতে কুশপুত্তলিকা দাহ করেন নতুনধারার নেতৃবৃন্দ।  

লাকসাম শীতের প্রকোপে ফুটপাতগুলোতে জমে উঠেছে ক্রেতাদের ভিড়

লাকসাম শীতের প্রকোপে ফুটপাতগুলোতে জমে উঠেছে ক্রেতাদের ভিড়



মোঃ রবিউল হোসাইন সবুজ, (লাকসাম) প্রতিনিধি: দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ন্যায় কুমিল্লা লাকসাম জেঁকে বসেছে কনকনে শীত ! গত তিন ধরে একনাগারে শীতের প্রকোপে অস্থির  হয়ে পড়েছে জনজীবন। শীত বাড়ার সাথে সাথে পৌর-শহরে ফুটপাতগুলোতে জমে উঠেছে কে  শীতবস্ত্র কেনাকাটার হিড়িক।ফুটপাত থেকে শুরু করে অভিজাত মার্কেটগুলোতে গরম কাপড়ের চাহিদা বাড়ছে। ক্রেতাদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে লাকসাম পৌর- শহরের ফুটপাত ও পুরাতন কাপড়ের দোকানগুলোতে শীতবস্ত্রের পসরা সাজিয়ে বসেছেন মৌসুমি ব্যবসায়ীরা।

কুমিল্লা জেলা লাকসাম উপজেলা দৌলতগঞ্জ বাজারে ফুটপাত গুলোতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বড় বড় শপিংমল থেকে শুরু করে ফুটপাতের দোকানে সোয়েটার, মাফলার, কান টুপি, মাথার টুপি, হাত মোজা, পায়ের মোজা, জ্যাকেট, প্যান্ট, হুডি, শাল, চাদর, কাশ্মীরি শাল, হরেকরকম গেঞ্জিসহ বাহারি ডিজাইনের শীতের কাপড় পাওয়া যাচ্ছে। তরুণীদের জন্য রয়েছে হাল আমলের স্টাইলিশ নকশার শীতের কাপড়।। টানা তিন দিন যাবৎ শৈত্য প্রবাহ বাড়ার ফলে মধ্যে স্তর ও নিম্ন স্থরের লোকজন এসব দোকানে শীতের কাপড় কেনার জন্য ভিড় করছে । শুধু নিম্ন ও মধ্যে স্তরের লোকজনই নয় বরং উচ্চবিত্ত স্তর সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজনও ভিড় করছে ওই ফুটপাতের শীতবস্ত্রের দোকান গুলোতে। মহা ধুমধামের সাথে ক্রয়-বিক্রয় চলছে ওই ফুটপাত গুলোতে।
উপজেলা  পৌর-শহরে ফুটপাতে শীত বস্ত্র বিক্রেতা  আব্দুল আলিমের সাথে কথা হলে সে জানায়, গত কয়েকদিন যাবৎ দোকান নিয়ে বসে থাকার পরেও দেখা মেলেনি কোন ক্রেতার। কিন্তু বর্তমান সময়ে শীতের প্রকোপ বাড়ার ফলে শীতবস্ত্র বিক্রয় হচ্ছে অন্যান্য দিনের তুলনায় প্রায় ৩ থেকে ৪ গুন। 
শীত বস্ত্র কিনতে আসা আকাশ চন্দ্র সাহা  জানায়, "বর্তমানে একটি শীতের কাপড় মার্কেটের ভালো কোন দোকানে কিনতে গেলে সর্বনিম্ন টাকা লাগে ৫' শ। কিন্তু এই ফুটপাতে অনেক সময় ভালো মানের কাপড় কম দামে পাওয়া যায় এজন্য এসেছি কমদামে নিজের পছন্দমত শীতবস্ত্র সংগ্রহ করার জন্য"।
শীতের প্রকোপ আরো বাড়লে এই দোকানদার গুলো প্রায় কেনা দামের চেয়ে ৩ থেকে ৪ গুন মুনাফা অর্জন করতে পারে বলে জানা গেছে।

লোহাগড়ায় বালুবাহী ভলগেটের ধাক্কায় নৌকাডুবে নিখোঁজ- ১, আহত- ২

লোহাগড়ায়  বালুবাহী ভলগেটের ধাক্কায় নৌকাডুবে নিখোঁজ- ১, আহত- ২
লোহাগড়ায়  বালুবাহী ভলগেটের ধাক্কায় নৌকাডুবে নিখোঁজ- ১, আহত- ২

মো: আজিজুর বিশ্বাস ষ্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃ
নড়াইলের লোহাগড়া নবগঙ্গা নদীতে বালুবাহী ভলগেটের ধাক্কায় মাছ ধরা নৌকাডুবির ঘটনায় একজন জেলে নিখোঁজ ও দুই জন আহত হয়েছেন।

 আহতদের মধ্যে একজনকে খুলনার একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। নিখোজ ব্যক্তির সন্ধানে রোববার সকাল থেকে ফায়ার সার্ভিসের ৫ সদস্যের একটি ডুবুরি দল উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার রাত ১১ টার দিকে উপজেলার নবগঙ্গা নদীর কাঞ্চনপুর এলাকায় একটি বালুবাহী ভলগেট একটি মাছ ধরার ডিঙ্গি নৌকাকে ধাক্কা দিলে নৌকা ডুবে যায়। এ সময়  নৌকায় থাকা পার্শ্ববর্তী কলাগাছী গ্রামের জেলে গৌতম দাস (৫০), তার ছেলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাগর দাস (২৫) আঘাত প্রাপ্ত হয়ে সাঁতরিয়ে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও রাধাকান্ত দাস (৫৫) এখনো নিখোঁজ রয়েছেন। 

গুরুতর আহত সাগর দাসকে রাতে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে রোববার সকালে খুলনার একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। 

লোহাগড়া ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার মাসুদ রানা জানান, নিখোঁজ রাধা কান্ত দাসের সন্ধানে খুলনা থেকে আগত পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট একটি ডুবুরি দল রবিবার সকাল থেকে উদ্ধার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। 

তবে এ রিপোর্ট (রবিবার বিকাল ৫ টায়) লেখা পর্যন্ত নিখোঁজ জেলের কোন সন্ধান মেলেনি। 

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আশিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় ৪টি বালুবাহী ভলগেট আটক করা হয়েছে এবং বিষয়টির তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।

বড়লেখায় জি আর নগদ টাকার চেক হস্তান্তর

বড়লেখায়  জি আর নগদ টাকার চেক হস্তান্তর
বড়লেখায়  জি আর নগদ টাকার চেক হস্তান্তর

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: খ্রীস্টান ধর্মাবলম্বীদের শুভ বড়দিন-২০২০ উদযাপন উপলক্ষে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ৫৩টি গির্জায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রান মন্ত্রণালয় থেকে প্রাপ্ত জি আর নগদ টাকার চেক হস্তান্তর করা হয় আজ।

উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ব্ড়লেখা মোঃ শামীম আল ইমরানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ, বড়লেখার চেয়ারম্যান জনাব সোয়েব আহমেদ। প্রতিটি গির্জায় শুভ বড়দিন উপলক্ষে ২২,৩৮৩ টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়।

মোংলা পৌর নিবার্চনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, স্বতন্ত্র মেয়র ও কাউন্সিলরদের মনোনয়নপত্র জমা

মোংলা পৌর নিবার্চনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, স্বতন্ত্র মেয়র ও কাউন্সিলরদের মনোনয়নপত্র জমা
মোংলা পৌর নিবার্চনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, স্বতন্ত্র মেয়র ও কাউন্সিলরদের মনোনয়নপত্র জমা



মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা ঃমোংলা পোর্ট পৌরসভা নিবার্চনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী  শেখ আব্দুর রহমান, বিএনপির আলহাজ্ব মো: জুলফিকার আলী ও স্বতন্ত্র আলহাজ্ব এইচ এম দুলাল মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। রবিবার বিকেলে উপজেলা নিবার্চন অফিসার ও সহকারী রিটার্নি কর্মকর্তা  মো: আব্দুল্লাহ আল মামুনের কাছে এ মনোনয়নপত্র জমা দেন প্রার্থীরা । এছাড়া সকাল থেকে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ৩টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরা  তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মেয়র পদে ৫ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৪ জন তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তবে সাধারণ কাউন্সিলদের সংখ্যা জানাতে পারেনি উপজেলা নিবার্চন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো: আব্দুল্লাহ আল মামুন। তিনি বলেন, সাধারণ কাউন্সিলরদের সংখ্যা রাতের আগে (৭/৮টা) জানানো সম্ভব নয়। কারণ বাগেরহাট জেলা রিটার্নিং কর্মকতার্র দপ্তরেও কেউ কেউ মনোনয়ন দাখিল করেছেন।  

আগামী ২২ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র বাছাই, ২৯ ডিসেম্বর প্রার্থীতা প্রত্যাহার ও ১৬ জানুয়ারী ভোট গ্রহণ। পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ১২টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে এ ভোট গ্রহণ। তবে এবারই প্রথম মোংলা পোর্ট পৌরসভায় ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ হতে যাচ্ছে। মোংলা পোর্ট পৌরসভার আসন্ন নিবার্চনে এখানে সাধারণ ভোটারের সংখ্যা ৩১ হাজার ৫২৮জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১৬ হাজার ৬৮১ আর নারী ভোটার ১৪ হাজার ৮৪০ জন। এর আগে ২০১১ সালের ১৩ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত নিবার্চনে এ পৌরসভায় ভোটারের সংখ্যা ছিল ২৫ হাজার ৯৫১জন। 

মোংলায় দেশ রুপান্তরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

মোংলায় দেশ রুপান্তরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত
মোংলায় দেশ রুপান্তরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত
মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ  মোংলায় দেশ রুপান্তরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। রবিবার বিকেলে মোংলা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে পত্রিকাটির দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে কেক কাটেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, আসন্ন মোংলা পোর্ট পৌরসভা নিবার্চনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রাথর্ী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আব্দুর রহমান, মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইকবাল বাহার চৌধুরী, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এম এ মোতালেব ও আহসান হাবিব হাসানসহ অন্যান্যরা। কেক কাটা শেষে প্রেসক্লাব চত্বর থেকে বের হওয়া র‍্যালীতেও খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেকসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। 

আশাশুনিতে মামলার সাক্ষিদের ওপর আসামী পক্ষের হামলা, লুটপাটের অভিযোগ

আশাশুনিতে মামলার সাক্ষিদের ওপর আসামী পক্ষের হামলা, লুটপাটের অভিযোগ


আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধি: আশাশুনিতে মামলার সাক্ষিদের উপর আসামী পক্ষের হামলা ও মুদি দোকিনে লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার দরগাহপুর ইউনিয়নের হোসেন পুর গ্ৰামে। সরেজমিন ঘুরে ও লিখিত এজাহার সূত্রে জানা গেছে, হোসেন পুর গ্ৰামের মৃত ব্রজেন্দ্রনাথ ঢালীর ছেলে দিপংকর ঢালী "ওমেন পাওয়ার ফাউন্ডেশন" নামে একটি এনজিও পরিচালনা করছেন। উক্ত এনজিও থেকে একই গ্ৰামের লক্ষীকান্ত মন্ডলের ছেলে সুভাষ মন্ডল ও প্রসাদ মন্ডল ঋণ গ্রহণ করেন। ঋণের টাকা সময়মত পরিশোধ না করায় "ওমেন পাওয়ার ফাউন্ডেশন" এর পরিচালক এবং কর্মচারীদের সঙ্গে তাদের বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে তারা এনজিও'র পরিচালক এবং কর্মচারীদের ওপর হামলা চালায়। এ ব্যাপারে আশাশুনি থানার সাধারণ ডায়েরি এবং কোর্টে মামলা দায়ের করা হয়। হোসেন পুর  বাজারে মামলার সাক্ষী পরিচালকের ভাই হরীদাশ ঢালীর মুদি দোকানে বাকি খেতেন মামলার আসামী সুভাষ মন্ডল ও প্রসাদ মন্ডল। বিগত কয়েক বছর হালখাতায় বাকি লেনদেন পরিশোধ না করায় পাওনা টাকা পরিশোধ করতে চাপ প্রয়োগ করায় গত ১৬ ডিসেম্বর সকালে হরীদাশ ঢালীর দোকানে হামলা চালায়ে হরীদাশ ঢালীসহ আরও কয়েক জনকে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম করে। এসময় তারা ক্যাশে থাকা নগত‌ টাকা ও মুদি দোকানের মালামাল লুট করে চলে যায়। রক্তাক্ত জখম হরীদাশ ঢালী সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন। সাক্ষীদেরকে হয়রানীসহ এ ঘটনাকে ধামাচাপা দেয়ার জন্য আসামী পক্ষ বিগত মামলার সাক্ষীদের নামে থানায় মিথ্যে অভিযোগ করে।

ওমেন পাওয়ার ফাউন্ডেশনের ঋণগ্রহীতা সদস্যা জদুয়ার ডাঙ্গা গ্ৰামের অরুনা সরকার এবং টৈংরাখালী গ্ৰামের সূচিত্রা মন্ডল প্রতিবেদককে জানান, এই এনজিও থেকে ঋণ গ্রহণ করে আমরাসহ বিভিন্ন এলাকার অনেকে অসহায় মানুষ উপকৃত হয়েছে। এনজিও মালিকের প্রতিবেশি সুভাষ মন্ডল ও প্রসাদ মন্ডল ঋণ নিয়ে সেটা পরিশোধ না করে উল্টো মালিকের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে চলেছে।

সাতক্ষীরা ও খুলনার আংশিক এলাকার গরীবের বন্ধু নামে পরিচিত "ওমোন পাওয়ার ফাউন্ডেশন" এরং মালিকের নামে মিথ্যে ষড়যন্ত্রকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

চীনে বাংলাদেশি চিকিৎসকের বেল্ট এন্ড রোড ফ্রেন্ডশিপ অ্যাওয়ার্ড অর্জন

চীনে বাংলাদেশি চিকিৎসকের বেল্ট এন্ড রোড ফ্রেন্ডশিপ অ্যাওয়ার্ড অর্জন

প্রথম কোনো বাংলাদেশি হিসেবে 'বেল্ট এন্ড রোড ফ্রেন্ডশিপ অ্যাওয়ার্ড' পেলেন বাংলাদেশি চিকিৎসক মিসবাউল ফেরদৌস। ডাঃ মিসবাউল ফেরদৌস চীনের শ্যানডং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। আত্মমানবতার সেবায় বিরল এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বাংলাদেশি এই চিকিৎসক। সেই সাথে তিনি পেয়েছেন আন্তর্জাতিক মানের স্বীকৃতিও। ডাঃ মিসবাউল বাংলাদেশের চট্টগ্রামের সন্তান


করোনা প্রাদুর্ভাবের সময়ে চীনের পাশে থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়ায় সম্মানসূচক এ পুরষ্কার প্রদান করা হয় ডাঃ মিসবাউল ফেরদৌসকে। গত শুক্রবার ১৮.১২.২০২০ তারিখের সন্ধ্যায় জাতীয় সম্মেলন কেন্দ্র বেইজিং-এ 'চায়না কার্ডিওভাস্কুলার হেলথ ২০২০' শীর্ষক সম্বেলনে তার হাতে তুলে দেয়া হয় এ পুরষ্কার।

বছরের শুরুর দিকে করোনা মহামারী চীনে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ায়, পুরো চীন জুড়ে মেডিকেল সরঞ্জামাদি সংকট দেখা দেয়। এসময় সৌদি আরবে 'আইএমসি লাইভ-৮' সম্মেলনে ছিলেন বেইজিংয়ের ফুওয়াই হাসপাতালে কর্মরত বাংলাদেশি চিকিৎসক ডাঃ মিসবাউল ফেরদৌস। ডাঃ মিসবাউল ওইসময় নিজস্ব অর্থায়নে সৌদি আরবের প্রায় ১৪ টি মেডিকেল স্টোর থেকে মাস্ক সংগ্রহ করে বেইজিং এ ফিরে আসেন। এগুলো তিনি চীনের বেইজিং, শ্যানডং, ছংছিং, কুনমিং, নিংশিয়া, সিচুয়ান ও আনহুই প্রদেশে বিতরণ করেছিলেন। এরপরে তিনি পর্যায়ক্রমে ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড ও বাংলাদেশ থেকে আরো ৩২ হাজার মাস্ক সরবারহ করে চীনের উহান, সাংহাই, শেনচেন ও ছংছিং প্রদেশে বিতরণ করেন।


এছাড়াও তিনি বাংলাদেশে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় হাসপাতালগুলোর জরুরি পরিস্থিতিতে তাৎক্ষণিকভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। দেশের সংকটকালীন মুহূর্তে চীনের প্রথম সারির তিনটি সংগঠন ও কয়েকজন চীনা ডাক্তারের সহযোগিতায় সুরক্ষা স্যুট, চশমা, ফেস-শিল্ড, সার্জিক্যাল মাস্ক ও এন-৯৪ মাস্ক চীন থেকে পাঠিয়েছিলেন ডাঃ মিসবাউল। যেগুলো ডাঃ মিসবাউলের দেশপ্রেমের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। 

ডাঃ মিসবাউল এশিয়ান সোসাইটি অব কার্ডিওলজি (ASC) এর সহ-সভাপতি। এছাড়াও তিনি এবছর এশিয়া প্যাসিফিক প্রাইমারি হেল্থ অ্যাসোসিয়েশন (APPHA) এর ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে আগামী ৬ বছরের জন্য নিযুক্ত হয়েছেন।

 

অজয় কান্তি মন্ডল

ফুজিয়ান, চীন।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের কার্যকারী কমিটি সভা

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের কার্যকারী কমিটি সভা

বেলাল উদ্দীন স্টাফ রিপোর্টারঃ  এম.রেজাউল করিম চৌধুরীর বহদ্দারহাট বাড়িস্থ বাসভবন প্রাঙ্গণে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন (এমপি)।

আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ  (এমপি)।চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দিন, সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এম রেজাউল করিম চৌধুরী, চসিক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন, সিডিএ চেয়ারম্যান  জহিরুল আলম দোভাষ (ডলফিন), আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, কোষাধ্যক্ষ আবদুছ ছালাম সহ নগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

তিন জয়িতার মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর এক গল্প

তিন  জয়িতার মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর এক গল্প


রাজশাহী ব্যুরোঃ
নওগাঁর আত্রাইয়ে উপজেলা প্রশাসন  ও মহিলা বিষয়ক অফিসের আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষে সাফল্য অর্জনের জন্য শিক্ষা ও চাকুরীর ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনের জন্য সফল জননী হিসাবে সাফল্য অর্জনের জন্য নির্যাতনের বিভীষিকা

মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন পরিচালনার জন্য সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখার জন্য শ্রেষ্ঠ জয়িতার সম্মাননা স্বরুপ অরুনা রানী,আদুরী খাতুন এবং রেহেনা বানুকে জয়িতা সম্মাননা প্রদান করা হয়। 

তাদের অনুভূতি জানতে চাইলে জয়িতা অরুনা রানী বলেন, আমার স্বামী অসুস্থ ও অক্ষম। সাংসারিক কাজ কর্ম তেমন করতে পারে না। আমি বাঁশ ও বেতর কাজের প্রশিক্ষন নিয়ে কাজ শুরু করি। এখন সংসারের অভাব অনেকটাই কমে গেছে। আমার দেখে প্রতিবেশি আরো অনেকে এ কাজ শুরু করেছে। বর্তমানে সকল প্রতিকুলতা কাটিয়ে আমি সুখে দিন যাপন করছি।

জয়িতা মোছা: আদুরী খাতুন বলেন, অভাবি বাবা-মার সংসারে তিন মেয়ের মধ্যে আমি ছোট। অর্থের অভাবে বিএ ভর্তি হয়েও পড়াশোনা রেখে বিয়ের পিড়িঁতে বসতে হয়। আমাদের ১টি সন্তান হয়। ৬ বছর সংসার ভালোই চলে। স্বামীর দোকান চুরি হলে মানুষের কাছে অনেক টাকা ধার-দেনা করে স্বামী। একপর্যায়ে স্বামীকে গ্রাম ছেড়ে ঢাকায় যেতে হয়। নিরুপায় হয়ে আমি বিভিন্ন জায়গাতেই চাকুরী এবং মহিলা বিষয়ক অফিসের মাধ্যমে সেলাই এর উপর প্রশিক্ষন নেই। চাকুরীর পাশাপাশি মানুষের জামা-প্যান্ট সেলাই করে সংসার চালিয়ে স্বামীন দেনা পরিশোধে সহযোগিতা করি। বর্তমানে আমরা সুখে শান্তিতে জীবন যাপন করছি।

জয়িতা রেহেনা বানু বলেন, বাবা-মার ৮ সন্তান হওয়ায় আমার প্রতি অবহেলা অনাদর ছিলো চরম। মুখ বুজে সহ্য করতে হতো অনেক কিছু। ইচ্ছা থাকা সত্তেও পড়াশোনা করতে পাড়িনি। চাকুরী হয় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। বিয়ের দুই বছরের মাথায় প্রথম সন্তান হয় আমাদের। পরপর তিন সন্তান কে আদর যত্ন করে বড় করেছি। তারা এখন সরকারের প্রথম শ্রেণির চাকুরী করে। ২০১০ সনে প্রধান শিক্ষক হিসেবে প্রমোশন পেয়ে সম্মানের সাথে তা সমাপ্ত করি। বর্তমানে আমরা সুখে শান্তিতে জীবন যাপন করছি।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার মো. মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, কোন কাজকে ছোট না ভেবে অন্যের কাছে হাত না বাড়িয়ে কষ্টকে জয় করে সামনে এগিয়ে চলার জন্য অরুনা রানী, আদুরী খাতুন এবং রেহেনা বানুকে ধন্যবাদ জানান। 

নওগাঁর আত্রাইয়ে বেইলি ব্রিজটি ঝুকিপূর্ণ বেহাল দশা!

নওগাঁর আত্রাইয়ে বেইলি ব্রিজটি ঝুকিপূর্ণ  বেহাল দশা!

রাজশাহী ব্যুরোঃ
নওগাঁর আত্রাই নদীর উপর একমাত্র বেইলি ব্রিজের স্টিলের পাটাতনে জং ধরে জায়গায় জায়গায় ফুটো হয়ে দিন দিন চলাচলে ঝুঁকি বেড়েই চলেছে। কোনো এক সচেতন ব্যক্তি পথচারীদের সতর্ক করতে সেই ফুটোতে কাঠ রেখে দিয়েছেন।

তার পরও সেতু পারাপারে আজ সকালে অসাবধানতা বসত মটরসাইকেল উঠে সেই স্থানে ফাঁকা হয়ে গেছে। এছাড়া ব্রিজের বেশিভাগ পাটাতন নড়বড়ে হয়ে গেছে। এটি পারাপারে বুক কাঁপে পথচারীদের, এই বুঝি সেতু ভেঙে পড়ে যাবে।

সতর্কভাবে যানবাহন এবং লোকজন কোনোমতে সেতু পাড়াপাড় হন। এটি আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের সঙ্গে নদীর দক্ষিন পাড়ের সংযোগকারী একমাত্র বেইলি ব্রিজ। প্রতিদিন হাজার হাজার যানবাহন এবং মানুষের চলাচলের এই বেইলি ব্রিজটি দিনের পর দিন এমন দৈন্যদশায় থাকলেও এটি মেরামতে কোনো উদ্যোগই নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, এলাকাবাসীর দীর্ঘ দিনের দাবির প্রেক্ষিতে ১৯৯৫ সনে তৎকালীন সরকার রেলওয়ের পুরোনো পিলারের উপর এ ব্রিজটি নির্মাণ করেন।ব্রিজ নির্মানের পর হতে নদীর উভয় পার্শের মধ্যে সেতুবন্ধন ঘটায় ব্যবসা-বানিজ্যসহ যোগাযোগ ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসে। তারপর হতে আত্রাই নদীর উপর দিয়ে পার্শ্ববর্তী নাটোর, নওগাঁ, বগুড়া এবং রাজশাহী জেলার মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থার মিলবন্ধন হয়। সংস্কারের অভাবে ব্রিজটির বেশিভাগ স্থানের স্টিলের পাটাতনের লোহায় জং ধরে জোড়ার মুখ ফাঁকা অবস্থায় জরাজীর্ণ এবং ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে আছে। মাঝে মাঝে পাটাতন ফুটো হয়ে থাকায় সেই ফুটোতে পড়ে কেউ যেন আহত না হন সে জন্য কোনো সচেতন ব্যক্তি কাঠ রেখেছিলেন। এ সেতু পারাপারে প্রতিনিয়ত ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন যানবাহন এবং এলাকাবাসী।

সেকেন্দার আলী নামের এক পথচারী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন,প্রতিনিয়ত এ ব্রিজ দিয়ে হাজার হাজার যানবাহন এবং মানুষ যাতায়াত করেন আর এই ব্রিজে উঠে ভয়ে থাকতে হয় কখন পা গর্তে পড়ে যায়।পথচারী আরমান হোসেন বলেন, এই ব্রিজের পাটাতন অনেক দিন থেকেই ভাঙা থাকায় যাতায়াত করতে গিয়ে প্রায়ই হেঁাচট খেতে হয়। দীর্ঘদিন ধরে এটি বেহাল হলেও কেউ তা মেরামত করছে না। আর রাতের বেলায় ব্রিজে কোনো সড়কবাতি না থাকায় সন্ধ্যার পরই ভূতুড়ে অবস্থা বিরাজ করে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ছানাউল ইসলাম বলেন, মেজারমেন্ট করা শেষ দ্রুত সময়ে মেরামত হয়ে যাবে। এছাড়া পাশের্ব স্থায়ী ব্রিজ দিয়ে চলাচল শুরু হলে আর সমস্যা থাকবে না। 
মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো 
০১৭১০৯৬৭৫২২
২০/১২/২০২০

মোবাইল কোর্টে আসামি কে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড

 মোবাইল কোর্টে  আসামি কে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ১নং বর্ণি ইউনিয়নের সৎপুর গ্রামে নেশাগ্রস্ত হয়ে বাবা মাকে মারধর করা অবস্থায় এক ব্যক্তিকে এলাকাবাসী আটক করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বড়লেখা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ শামীম আল ইমরান কে খবর দিলে , ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঘটনার সত্যতা উদঘাটিত হওয়ায় ও আসামির দোষ স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দেয়ায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ধৃত আসামি কে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮ অনুসারে ০৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

ব্রাক্ষনবাজারের উদ্দ্যোগে আলোচনা সভা ও ইসলামী সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা

ব্রাক্ষনবাজারের উদ্দ্যোগে আলোচনা সভা ও ইসলামী সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃসামাজিক সংগঠন আলোর নিশান ব্রাক্ষনবাজারের উদ্যোগে  গত ১৮ ডিসেম্বর  রোজ শুক্রবার, হিংগাজিয়া সিনিয়র  মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ ও ব্রাহ্মণবাজার বায়তুল মা-মুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সাবেক খতিব ও ইমাম হযরত মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস সিদ্দিকী (রহ.) এর ইসালে সাওয়াব মাহফিল উপলক্ষে এক আলোচনা সভা এবং ইসলামি গজল সন্ধ্যার আয়োজন করা হয় । 

সংগঠনের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব, ফখরুল ইসলাম ও সদস্যা সাঈদ আহমদ এর যৌথ পরিচালনায়, যুগ্ম আহ্বায়ক সুয়েব আহমদের সভাপতিত্বে  উক্ত আলোচনা সভায়, প্রধান অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন RAB-১ ঢাকার সহকারী পরিচালক জনাব নোমান আহমদ, এছাড়াও উক্ত আলোচনা সভায় বিশেষ অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান, হাফিজ আলাউর রাহমান টিপু, কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান, কাজী মাও. ফজলুল হক খাঁন সাহেদ, ৫নং ব্রাক্ষনবাজার ইউ পি চেয়ারম্যান, প্রভাষক মমদুদ হোসেন, হিংগাজিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার শিক্ষক, জনাব ফয়জুর রহমান,  ইউসুফ- তৈয়বুন  বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুদ আহমদ, হিংগাজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শহিদ খাঁন,আব্দুল মুক্তাদির সিদ্দিকী,  প্রমুখ। 

এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন , নজরুল ইসলাম, এমদাদুল হক, হা: আব্দুর রউফ, নোমান আহমদ, সুলতান আহমদ, সবুজ আহমদ, জায়েদ আহমদ, মুহিবুর রহমান, আব্দুল কাইয়ুম, মঞ্জুরুল ইসলাম মিজু সহ আরো অনেক। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন, বর্তমান সময়ের নন্দিত ইসলামি সংঙ্গীত শিল্পী কবি মুজাহিদুল ইসলাম বুলবুল। 

এছাড়াও সংঙ্গীত পরিবেশন করে মদীনার কাফেলা ইসলামি শিল্পী গুষ্টি ব্রাক্ষনবাজারের শিল্পী বৃন্দ।

গভীর রাতে অসহায় মানুষের পাশে নবীনগরের ইউএনও একরামুল সিদ্দিক

গভীর রাতে অসহায় মানুষের পাশে নবীনগরের ইউএনও একরামুল সিদ্দিক

এস.এম অলিউল্লাহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে গভীর রাতে বস্ত্রহীন অসহায় ও ছিন্নমূল মানুষদের মাঝে শ্রীত বস্ত বিতরণ করেন ইউএনও একরামুল সিদ্দিক।

শনিবার গভীর রাতে কনকন শীতে আর হীমেল হাওয়ায় জুবুথুবু হয়ে কাঁপতে থাকা ও গভীর রাতে পলিথিন মোড়ানো ঘরে কোনোমতে ঘুমিয়ে পড়া নবীনগর পৌরসভার নারায়নপুর হাছান শাহ মাজারে কিছু অসহায় ও ছিন্নমূল মানুষদের মাঝে তিনি কম্বল বিতরণ করেন।

মানবতার ফেরিওয়ালা ইউএনও একরামুল ছিদ্দিক বলেন,আমাদের আশে পাশে এমন অনেক অসহায় ছিন্নমূল মানুষ অাছে যারা এই কনকন শীতে শীত বস্ত না থাকায় তারা ঘুমাতে পারছে না।অামাদের সবার উচিত তাদের পাশে দাড়াঁনো।আমি আমার সাধ্যমত তাদের কে সহযোগীতা করেছি,পর্যায় ক্রমে পূরো উপজেলার শীতার্ত মানুষের মাঝে শীত বস্ত বিতরণ করা হবে।

ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন যুবলীগ ও ছাত্রলীগের মাক্স বিতরণ

 ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন যুবলীগ ও ছাত্রলীগের মাক্স বিতরণ


মীরকাশেম চকরিয়া প্রতিনিধিঃ
মহামারী করোনা সারা বিশ্বের উন্নয়নের চাকা তছনছ করে দিছে। করোনার দ্বিতীয় ধাপ ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পেতে যাচ্ছে সাধারণ জনগণকে উদ্ধুদ্ধকরণ ও মাক্স বিতরণ করেন ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাঈমুল সিকদার ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা শাহ আকবর শামীম ।

বাংলাদেশ আওয়ামী নবীন লীগ" ময়মনসিংহ জেলা কমিটি গঠন

বাংলাদেশ আওয়ামী নবীন লীগ" ময়মনসিংহ জেলা  কমিটি গঠন



স্টাফ রিপোর্টারঃ আর.জে মিজানুর রহমান ইমনঃ "বাংলাদেশ আওয়ামী নবীন লীগ" ময়মনসিংহ জেলা শাখার কমিটি গঠন । উক্ত নব-গঠিত কমিটিতে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন, এইচ এম শিহাব ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাফায়াত হোসেন রিয়াদ । 

এছাড়া নব-গঠিত কমিটিতে অন্যান্য নেত্ববৃন্দরা হলেন সিনিয়র সহ-সভাপতিঃ লুৎফুর রহমান কাউছার, সহ-সভাপতি মোঃ মুশাহিদুল ইসলাম, রেজাউল করিম অপু, হুমায়ুন কবির আপেল, ডাঃ সাজেউল আলম শ্যামল, শাহাদাৎ হোসাইন সাব্বির, মোঃ শামিম, মঞ্ছুরুল ইসলাম, ফাহিম হাসান শুভ, ইঞ্জিনিয়ার সোহেল, তন্নয়ন আহমেদ নয়ন, মোঃ সুমন আহমেদ আরিফুল ইসলাম, সাংবাদিক আর.জে মিজানুর রহমান ইমন, জাহিদুল ইসলাম শরীফ, মোঃ আকাশ আহমেদ, মোঃ মোস্তফা কামাল, আবদুল্লাহ আল সজীব, জয় দাস, মোঃ নাইম, মোঃ আনোয়ার হোসেন, মোঃ আরাফাত, নাজমুল হাসান, শিশির আহম্মেদ, সোহাগ আলম, আরিফুল ইসলাম, আরফান ইয়ামিন শুভ, আতিকুল ইসলাম রনি, তুহিন আহমেদ খাঁন, সুপ্তি জামান বাবু সরকার, আমান উল্লাহ আমান, ইউসুফ সরকার, এ.জি সাব্বির, সৈয়দ মওদুদ আহমেদ, তাপস সরকার, মোঃ জহিরুল ইসলাম, মোঃ সৌরভ হাসান, মোঃ আশরাফুল ইসলাম, মোঃ রাজীব সরকার, মোঃ অনিক আহমেদ, মোঃ মাহফুজুর রহমান সানি, তুহিন হাসান হৃদয়, শাহাদত তানভীর, মেহেদী হাসান পলাশ, সুজন আহমেদ, রাকিব হাসান, রেজওয়ান মারুফ, এ.কে জয়, মোঃ শহিদুল ইসলাম  । 

সিনিয়র যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাজ রুমান, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ শান্ত, তাওহীদুল আহমেদ ইমন, মোঃ সোহেল মিয়া, মোঃ আরিয়ান মাহমুদ রাকিব, মোঃ নুরুল ইসলাম, মোঃ সাগর, মোঃ জোবায়ের ইসলাম, ফরহাদ হোসাইন, মোশাহিদুল, নিরফ ঘোষ, মোঃ সবুজ মিয়া, মতিউর রহমান শুভ,  সাংগঠনিক সম্পাদক রবিকুল ইসলাম রবি,  রিফাত খান বাবু, মোঃ দুর্বার মামুন, মোঃ সাব্বির ইসলাম শোভন, মোঃ নাজমুল অন্ত, মোঃ মাহমুদুল হাসান, জিয়ারুল হক অভি, নাজমুল হাসান টিটু, আশিকুল ইসলাম ট্রনিক, রাসেল খাঁন, ই.এ আশিক, মানিক মিয়া, মোঃ মোস্তফা মিয়া, আমিরুল ইসলাম, আশিকুর ইসলাম ফকির, সাইদুল ইসলাম, শাখাওয়াত হুসেন, মোঃ কামরুজ্জামান তানিম, জিহাদ আহমেদ, মোঃ সোহাগ, মোঃ রিফাত হোসেন, সালমান শেখ ইয়াশরাফ, মোঃ নিয়াজ মোর্শেদ । 

প্রচার সম্পাদক, মোঃ জিল্লুর রহমান সোহাগ উপ-প্রচার সম্পাদক তানিম আহমেদ রবিন, তরিকুল ইসলাম সৌরভ, সজীব সরকার, আবির ঘোষ জয়, কামরুল হাসান মামুন, আল মোস্তাকিম ফেরদৌস পল্লব । দপ্তর সম্পাদক, মোঃ শাহ আলম, উপ-দপ্তর সম্পাদক হৃদয় হাসান পারভেজ, মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, আবদুল্লাহ আল মুরাদ শান্ত, আশিকুর রহমান, মোঃ রাহমাতুল্লাহ, গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ রিয়াদ আহমেদ রেজভী, উপ-গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ মামুন মিয়া, মোঃ আল আমিন আশিক, ইসমাইল হোসেন, আনারুল ইসলাম, শিক্ষা ও পাঠ্যচক্র সম্পাদক মোঃ মেহেদী হাসান রাফি,  উপ-শিক্ষা-পাঠ্যচক্র সম্পাদক হৃদয় পারভেজ সাজ্জাদ হোসেন, আশিকুর রহমান, আনারুল ইসলাম, সাংস্কৃতি সম্পাদক মোঃ মাহমুদুল হাসান শিবলী, উপ-সাংস্কৃতি সম্পাদক মোঃ ফাইয়াজ, মোঃ মুহতামিত মুন, মোঃ মামুন সরকার, তাসলিম রাজ, গণ শিক্ষা ও পাঠ্যচক্র সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, আল সাদাত সাফাত, মোবারক আহমেদ, তানভীর হাসান মিয়াদ, ওয়াহিদ হাসান । 

ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক দয়াল চন্দ্র দাস, উপ-ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক মোঃ শাহিন মিয়া, হৃদয় খান, আশিক হাসান, নাজমুল হোসেন, আন্তর্জাতিক সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, উপ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক বিপুল সরকার, মোঃ ইমন, ফকরুল ইসলাম, রাজিব ফকির, ওবায়দুল হক । সাহিত্য সম্পাদক মোঃ মোবারক হোসেন, উপ-সাহিত্য সম্পাদক, ডাঃ মোঃ সোহেন, ফাহিম সরকার, তরিকুল ইসলাম শাওন, গণ যোগাযোগ ও উন্নয়ন সম্পাদক দূর্জয় দেবনাথ, উপ-গণ যোগাযোগ ও উন্নয়ন সম্পাদক তুষার ইমরান, আর.জ রিফাত, শাকিল খান, মোঃ মোস্তফা বিল্লাহ । মানব সম্পদ উন্নয়ন সম্পাদক, জাহিদুল ইসলাম, উপ-মানব সম্পদ উন্নয়ন সম্পাদক, আলিফ মাহমুদ, মারুফ শাওন আহমেদ, রবিকুল ইসলাম  । ধর্ম সম্পাদক হাফেজ বিল্লাল হোসেন, উপ-ধর্ম সম্পাদক, এইচ এম আল-আমিন, সারোওয়াদী শুভ, শাহ আলম সরকার উজ্জল, আলিফ মাহমুদ দ্বীন ইসলাম । পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, মোঃ মেহেদী, উপ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, মোঃ রাকিব, খাইরুল ইসলাম, অভি সাহা, মোঃ আল-আমিন। 

স্কুল ছাত্র সম্পাদক, সৌরভ হাসান রেজভী, উপ-স্কুল ছাত্র সম্পাদক,  হুমায়ুন কবির, আবু রায়হান, শেখ আকরাম সোহেল, খাইরুল ইসলাম তাকবীর, আপ্যয়ন সম্পাদক, সাগর আহমেদ, উপ-আপ্যয়ন সম্পাদক, মোঃ আকাম, মোঃ তারা মিয়া, মোঃ ফুল মিয়া, ছাত্র বৃত্তি সম্পাদক, মাহমুদুল হাসান লিমন, উপ-ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক, মোঃ জিসান আহমেদ, অপু, মোঃ সুজন মিয়া, তানজিল আহমেদ, মুক্তিযুদ্ধ ও গবেষণা সম্পাদক, রফিকুল ইসলাম রবি, উপ- মুক্তিযুদ্ধ সম্পাদক, মোঃ অনিক, মোঃ আজাহারুল ইসলাম, মোঃ মারুফ মিয়া, সমাজ সেবা সম্পাদক, জয় আহমেদ সাগর, উপ-সমাজ সেবা সম্পাদক,  সৈয়দ মওদুদ আহমেদ, রাশেদুল ইসলাম, প্রেম, ক্রীড়া সম্পাদক, পারভেজ আহমেদ, উপ-ক্রীড়া সম্পাদক, ফরিদুল ইসলাম, তুর্জয় আহমেদ, দেলোয়ার হুসেন, শাকিল আহমেদ, সানাউল্লাহ হক সুমন, আইন সম্পাদক, সাদ্দাম হোসেন, উপ-আইন সম্পাদক, আরিফুল ইসলাম, হুমায়ুন আহমেদ, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক, রিফাত আহমেদ শুভ, উপ-তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক, হাসিবুল ইসলাম (শান্ত), মফিদুল ইসলাম রাজ, কাজল সরকার, সহ-সম্পাদক, তুহিন আহমেদ হৃদয়, মাফুজ আলম, আল ওয়ালীদ, মোঃ আবু রায়হান, মোঃ রাফি, মোঃ মেরাজ, মোঃ সোয়াদ, মোঃ মাহমুদুল হাসান দিপু, সৈয়দ মাহমুদ, মোঃ মোশারফ হোসেন তুষার, 
মোঃ শামীম মিয়া, মোঃ মরম মিয়া, দেলোয়ার হোসাইন, শাকিল খান, মোঃ রাজিব, মোঃ জিয়া, আনাস আকন্দ সাগর, জয় আহমেদ সাগর, সাখাওয়াত ইসলাম সজীব, কৃষি সম্পাদক, মেহেদী হাসান, উপ-কৃষি সম্পাদক, আল-মামুন, তোফাজ্জল হোসেন, শাকিব খান, পাঠাগার সম্পাদক, হামিদুর রহমান রাকিব, উপ-পাঠাগার সম্পাদক, জজ মিয়া, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক, মুশফিকুর রহমান, উপ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক, শরীফ উদ্দিন, হিমেল সরকার, নাহিদ হাসান প্রিন্স, অর্থ সম্পাদক, রাজন আহমেদ, উপ-অর্থ সম্পাদক, শুভ চন্দ্র দাস, ফারাবী হাসান রানা, জয় সরকার মিঠুন, বন ও খনিজ সম্পদ সম্পাদক, পাভেল আহমেদ বাপ্পি, উপ-বন ও খনিজ সম্পদ সম্পাদক, আমানুল্লাহ, আশরাফুল ইসলাম, শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক, সেলিম তালুকদার, উপ-শিল্প ও বাণিজ্যি সম্পাদক, সাগর আহমেদ ফয়সাল, আকরাম হোসেন, তানভীর আহমেদ, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক, শাহীন মাহমুদ, উপ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক, রাহমাতুল্লাহ, শাকিব মিয়া, সম্মানিত সদস্য, শরীফুল ইসলাম উজ্জ্বল, রুমান মিয়া, মোঃ হারুণ, মোঃ হাফেজ মিয়া, মোঃ আপন আহমেদ, মোঃ আল-আমিন, মোঃ মোস্তফা তালুকদার, মোঃ আবু সাইদ মিয়া, শরীফ উদ্দিন, মোঃ মনির মিয়া  ।

উল্লেখ্য, নোভেল করোনা ভাইরাস বৃদ্ধি জনিত কারণে, দেশের পরিস্থিতি প্রেক্ষাপটে (১৫ই ডিসেম্বর) স্বাস্থ্য-বিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে, অনলাইনের মাধ্যমে ময়মনসিংহ জেলার ২৭১ সদস্য বিশিষ্ট নব-গঠিত কমিটির অনুমোদন দিয়েছেন, "বাংলাদেশ আওয়ামী নবীন লীগ" কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি লুৎফুর রহমান সুইট ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ নুরে আলম উসমানী । ময়মনসিংহ জেলা কমিটির সভাপতি এইচ এম শিহাব বলেন, করোনা পরিস্থিতি বৃদ্ধি জনিত কারণে নব-গঠিত কমিটি গঠন হওয়ার পর কোন আনন্দ মিছিল আলোচনা সভা এবং কেন্দ্রীয় নেত্ববৃন্দ ও কোন স্থানীয় নেতৃবৃন্দদের কোন ধরনের সংবর্ধনা দিতে পারিনি । তিনি তার বক্তব্যের এক প্রসঙ্গে বলেন, আমাকে "বাংলাদেশ আওয়ামী নবীন লীগ" ময়মনসিংহ জেলা কমিটির সভাপতি পদে নির্বাচিত করায়, কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি লুৎফুর রহমান সুইট ভাইয়ের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই ।  তিনি আরো বলেন, ময়মনসিংহ জেলা শাখার অধীনস্থ যে সকল উপজেলা কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে, এবং যে উপজেলা গুলোতে কমিটি সাংগঠনিক কার্যকম স্থগিত রয়েছে সেগুলো খুব শ্রীর্ঘই বিলুপ্ত ঘোষণা করে নতুন কমিটি গঠন করা হবে ।