গাংনীতে কানাডায় লোক পাঠানোর নামে চলছে নানা প্রতারণা

গাংনীতে কানাডায় লোক পাঠানোর নামে  চলছে  নানা প্রতারণা

তানভীর আহমেদ, মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধি: মেহেরপুরের গাংনীতে কানাডায় লোক পাঠানোর নামে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পায়তারা চলছে। গাংনী উপজেলার সিন্দুরকোটা গ্রামের ন্যাড়া বিশ্বাসের ছেলে এরশাদ আলী এই পায়তারা করছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।নাম প্রকাশ করা যাবে না এমন শর্তে সিন্দুরকোটা গ্রামের একাধিক ব্যাক্তি জানিয়েছে, মাত্র ১২ হাজার টাকা খরচে কানাডায় পাঠানোর কথা বলছে এরশাদ। কিছুদিন আগে দুইটা মাইক্রোবাসে করে প্রায় ২০ জনকে ঢাকা থেকে মেডিকেল করিয়ে এনেছে। সে আরো বলছে ৬ লক্ষ টাকা কানাডায় গিয়ে দিতে হবে। 
এমন তথ্যের ভিত্তিতে কানাডা যেতে আগ্রহীর ছদ্ববেশে  সংবাদ কর্মী কথা বলে এরশাদের সাথে। 

সাক্ষাতে এরশাদ আলী বলেন, কানাডা যেতে সর্বনিম্ন অষ্টম শ্রেণি পাশ হওয়া লাগবে। মোট খরচ হবে ৬ লক্ষ টাকা যা কানাডা গিয়ে মাসে মাসে বেতন থেকে  পরিশোধ করতে হবে। এছাড়া মেডিকেল করতে ১২ হাজার টাকা লাগবে যা এখন দিতে হবে। 

এরপর সাংবাদিকের পরিচয় দিলে গড়িমসি শুরু করে এরশাদ আলী। তখন সে ২০ জনের মেডিকেলের কথা অস্বীকার করে বলে এ পর্যন্ত মাত্র ৭ জনের মেডিকেল করিয়েছি এবং তারা সবাই আমার নিকট আত্মীয়। আপনি অফিসের সাথে কথা বলেন বলে সিভিএস কানাডা ভিসা সার্ভিসেস নামের একটি ফেসবুক লাইক পেজের ঠিকানা দেয়। 

ওই লাইক পেজে দেওয়া নম্বরে যোগাযোগ করলে ইকবাল হোসেন নামের একজনের সাথে কথা হয়। ইকবাল হোসেন জানান, কানাডা যেতে মোট ৬ লক্ষ টাকা লাগবে। ৩ লক্ষ টাকা ভিসা হাতে পাওয়ার পর দিতে হবে এবং বাকি ৩ লক্ষ টাকা কানাডায় গিয়ে দিতে হবে। মেডিকেলের জন্য সাড়ে ৮ হাজার টাকা দিতে হবে। বেতনের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রতি মাসে এক থেকে দেড় লক্ষ টাকা বেতন হবে। আবেদনকারী প্রত্যেকে কানাডা যেতে পারবে ৯৯% নিশ্চিত।

তবে কানাডা যাওয়ার তথ্য সংগ্রহের জন্য অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েব সাইট ঘাটলে এমন কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। প্রত্যাকটি ওয়েব সাইটেই কানাডা যেতে অনেক জটিলতা ও সতর্কতার তথ্য পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে আরো তথ্য জানার জন্য এরশাদের মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি স্থানীয় আ.লীগ নেতা কামাল হোসেন সাথে ফোন ধরিয়ে দেয়। কামাল হোসেন মুঠোফোনে বলেন, আমরাই লোক পাঠায়। কে তুমি, তোমার বাড়ি কোথায়? তুমি আর কখনও এই নম্বরে ফোন দিবা না। আপনারা নিউজ করে আমার কী করবেন? 

স্থানীয় সচেতন মহল বলছে, বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়ানোর জন্যই কিছু আত্মীয় স্বজনের মেডিকেল করিয়েছে। এরশাদের এই ফাঁদে পা না দেওয়ার জন্যও অনুরোধ করেন তারা। সেই সাথে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন সচেতন মহলের অনেকে।

গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রহমান জানান, ভুক্তভোগী কেউ লিখিত অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কুলাউড়া "প্রয়াস " ক্লাবের পক্ষ থেকে মানবতার উপহার সামগ্রী বিতরণ

কুলাউড়া "প্রয়াস " ক্লাবের পক্ষ থেকে মানবতার উপহার সামগ্রী বিতরণ

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় মানব সেবার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে গড়ে ওঠা সংগঠন  "প্রয়াস" ক্লাবের পক্ষ  থেকে ৩০ এপ্রিল  ১৭ রমজান বেলা ৩ ঘটিকার  দিকে শহরের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে প্রায় ৭৩ টি পরিবারের মাঝে  মানবতার উপহার  সামগ্রী  তুলে দেয়া হয়।

মানবতার উপহার  সামগ্রী তুলে দেয়ার সময়  ক্লাবের সভাপতি সাইফুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুলাউড়া পৌরসভার মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ।  পৌর কাউন্সিলর সাইফুর রশীদ সুমন, কুলাউড়া স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এহসান আহমদ টিপু, কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সায়হাম রুমেল, সংগঠক তারেক আহমদ, সায়েম আহমদ রাব্বী, লিপন আহমদ, তোফাজ্জল হোসেন খান রকি, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেল আহমদ প্রমুখ।

প্রয়াস সংগঠনের উপস্থিত ছিলেন সাবেক সভাপতি এস এ সুমন, তানভীর আহমদ চৌধুরী, সিনিয়র সদস্য তৌসিফ চৌধুরী, সিনিয়র সদস্য রাফাত আহমেদ, সিনিয়র সদস্য  সাহেদ আহমদ রনি, সিনিয়র সদস্য  শেখ পাবেল,, সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাজের আহমদ ফাহাদ।  সিনিয়র সহ সভাপতি আসাদুজ্জামান চৌঃ শুভ, সিনিয়র সহ সভাপতি মোঃ নূর আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক   কামরুল ইসলাম শান্ত, সহ সাংগঠনিক  আসনাফ আজিজ, ইসলামি সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক  মাহবুব আহমদ প্রমুখ।

ইন্দুরকানী ছাত্রকল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

ইন্দুরকানী ছাত্রকল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

মিঠুন কুমার রাজ,স্টাফ রিপোর্টারঃ
করোনাভাইরাসের করালগ্রাসে বিপর্যস্ত সমগ্র বিশ্ব। বাংলাদেশের মতো মধ্যম আয়ের দেশে সেটি যেন মহা-বিপর্যয়ে পরিণত হয়েছে। এরমধ্যে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর আসন্ন। অসহায়, সুবিধা বঞ্চিত ও নিম্নবিত্ত মানুষজন দুবেলা আহার জুটাতে পারছে না, তাদের ঘরে ঈদ আয়োজন যেন অকল্পনীয়। তাই বলে তারা কি ঈদ-আনন্দে শরিক হতে পারবে না?

ঠিক এমনটা বিবেচনা করে ইন্দুরকানী ছাত্রকল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে শুক্রবার  অর্ধশতাধিক পরিবারের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। এ সময় তাদের মাঝে ঈদের লাচ্ছাসেমাই, চিনি, দুধ, মশলা, লবণ, চালসহ নানা সামগ্রী দেওয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইন্দুরকানী ছাত্রকল্যাণ পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা রাকিবুল ইসলাম রাকিব,আহবায়ক সাইয়াদুর রহমান তুহিন,যুগ্ম-আহবায়ক তাসনিম আন নূর অয়ন, যুগ্ম-আহবায়ক মিঠুন কুমার রাজ, ওবায়দুল সিকদার, সাকিব আল নূর,মাহমুদল হাসান রাসেল,সাকিবুল ইসলাম,মাসুদ রানা রাজু,মারুফ হাওলাদার প্রমুখ।

অসহায়, সুবিধা বঞ্চিত ও নিম্নবিত্ত মানুষদের সাহায্যের লক্ষ্যে বিগত তিন বছর ধরে কাজ করছে ' ছাত্রকল্যাণ পরিষদ' নামক সংগঠনটি। এটি নিজেদের অনুদানে পরিচালিত হয়।সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা মো. রাকিবুল ইসলাম জানান, এসব মানুষ আপনার আমার ভাই-বোন, আত্মীয়-স্বজন। করোনার সময় তো বটেই অন্য সময়েও তাদের সাহায্য করা আমাদের কর্তব্য। মিঠুন কুমার রাজ বলেন,ঈদের আনন্দটা সবার সঙ্গে ভাগাভাগি করে নেওয়াই আমাদের লক্ষ্য। সবাই ঘরে থাকুন, সাবধানে থাকুন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন।

বড়লেখায় ৭৫ টি পরিবারের মাঝে রামজানের ইফতার সামগ্রী বিতরণ

বড়লেখায় ৭৫ টি পরিবারের মাঝে রামজানের ইফতার সামগ্রী বিতরণ

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার বর্ণী ইউনিয়নের পাকশাইল গ্ৰামের পাকশাইল গ্রেট ভিশন এসোসিয়েশন  এর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় গ্রেট ভিশনের সাবেক সভাপতি জনাব এইচ এম ফয়ছল আহমদ এর অর্থায়নে আজ শুক্রবার ৩০/০৪/২০২১ইং: ০৩.০০ সময়ে পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে গ্রামের হতদরিদ্র, নিম্ন আয়ের ৭৫ টি পরিবারকে রামজানের ইফতার সামগ্রী, চাল, ডাল,চানা,তেল ইত্যাদি সহ নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়।

এই সময়ে উপস্থিত ছিলেন পাকশাইল গ্রেট ভিশন এসোসিয়েশন  এর সভাপতি,সেক্রেটারি, সদস্য বৃন্দ।

বড়লেখায় ১২০ জন অসহায় হতদারিদ্র মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

বড়লেখায় ১২০ জন অসহায় হতদারিদ্র মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ
বড়লেখায় ১২০ জন অসহায় হতদারিদ্র মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ১নং বর্ণী ইউনিয়নের পাকশাইল গ্ৰামের পাকশাইল তারুণ্য সমাজকল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে করোনা মহামারি কালীন এমন অবস্থাতেও মানবতার কাজে পিছিয়ে নেই।
অনেক হত দারিদ্র মানুষ আছে আমাদের আশেপাশেই আর করোনাকালীন সময়ে তাদের অবস্থা আরো বেশি নাজেহাল। 
হয়ত তাদের সার্বিক দায়িত্ব নেওয়া আমাদের পক্ষে সম্ভব নয় তবে চেষ্ঠা করতে পিছু কখনোই হইনা স্বার্থ অনুযায়ী। শুক্রবার বিকেল ০২.০০ সময়ের ১২০ জন অসহায় হতদারিদ্র মানুষের কাছে ইফতার বিতরণ করা হয়।
আগামি দিন গুলোতে তাঁরা বরাবরের মতোই চেষ্টা করে যাবে।অসহায় মানুষদের পাশে দাড়ানোর এটাই তাদের প্রত্যাশা।

সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন এবং,তাদের সংগঠনের জন্য এমনকি সে সাথে সমগ্র মানব জাতীর জন্য এবং সে সাথে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। আজকে যারা নিরলস পরিশ্রম করে এমন একটি ইভেন্টের আয়োজন করেছে।

সিরাজগঞ্জ রতনকান্দিতে অবৈধ ভাবে ফসলি জমির মাটি কাটার দায়ে অর্থদণ্ড

সিরাজগঞ্জ রতনকান্দিতে অবৈধ ভাবে ফসলি জমির মাটি কাটার দায়ে অর্থদণ্ড
সিরাজগঞ্জ রতনকান্দিতে অবৈধ ভাবে ফসলি জমির মাটি কাটার দায়ে অর্থদণ্ড

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ শুক্র বার গোপন সূত্রের ভিত্তিতে অবৈধ উপায়ে বিপণনের উদ্দেশ্যে ফসলি জমি কাটা হচ্ছে সংবাদ পেয়ে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার রতন কান্দি ইউনিয়নের চিলগাছা  নামক স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন সিরাজগঞ্জ সদর সহকারী কমিশনার(ভুমি)
মো,রহমত উল্লাহ।তিনি জানান শুক্রবার  সকাল  ১১.০০ টার দিকে এ অভিযান পরিচালনা করা হয় বলে জানান।তিনি আর ও বলেন এসময় মাটি কাটারত অবস্থায় একটি ভ্যাকু মেশিন ও তিনটি ট্রাক পাওয়া যায়। ঘটনাস্থল থেকে সংশ্লিষ্ট  ব্যক্তিদেরকে আটক করা হয়।  পরবর্তীতে বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন অনুযায়ী ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ হাজার টাকা) অর্থদন্ড করেন।

মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন সদর থানা পুলিশ ও উপজেলা ভূমি অফিসের স্টাফবৃন্দ।তিনি বলেন এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

নওগাঁয় ২৫ বোতল ফেন্সিডিল সহ ২ নারী আটক

নওগাঁয় ২৫ বোতল ফেন্সিডিল সহ ২ নারী আটক
নওগাঁয় ২৫ বোতল ফেন্সিডিল সহ ২ নারী আটক

রহমতউল্লাহ,নওগাঁ  প্রতিনিধি: নওগাঁয় ২৫ বোতল ফেন্সিডিল সহ ২ নারীকে আটক করেছে গোয়েন্দা ( ডিবি) পুলিশ। ভারতীয় আমদানি নিষিদ্ধ  ফেন্সিডিল কেনাবেচা হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নওগাঁ জেলা গোয়েন্দা ( ডিবি) পুলিশের চৌকস অফিসার এস আই মিজানুর রহমান মিজান এর নের্তৃত্বে একটি চৌকস দল অভিযান চালিয়ে ২৫ বোতল ফেন্সিডিল সহ হাতেনাতে দু' নারীকে আটক করেন।

ফেন্সিডিল সহ আটককৃত দু নারী হলেন, মুন্নি আক্তার (২৮) এবং সাবিনা বেগম (৩৫)। আটককৃত মুন্নি আক্তার জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার ভিমপুর গ্রামের আজিজুলের মেয়ে। সাবিনা বেগম দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর উপজেলার দক্ষিণ বাসুদেবপুর গ্রামের আনিছুর ইসলামের স্ত্রী।
 
অভিযানে নের্তৃত্বদানকারী এস আই মিজানুর রহমান মিজান বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রতিবেদককে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তথ্য পেয়ে নওগাঁ জেলা সদর উপজেলার দোগাছী গ্রাম থেকে তাদের হাতেনাতে আটক করা হয়। এরা দীর্ঘদিন যাবৎ মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত এবং বিভিন্ন জেলায় মাদক সরবরাহ করেন।
 
আটকের সময় তাদের কাছ থেকে ২৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। তিনি আরো বলেন, আটককৃতদের বিরুদ্ধে নওগাঁ সদর মডেল থানায় মাদক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করে আদালতের মাধ্যমে শুক্রবার তাদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

লালমনিরহাটে পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল

লালমনিরহাটে পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে  আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল

রশিদুল ইসলাম রিপন, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ আজ ৩০ এপ্রিল  (শুক্রবার )  আসরের নামাজের পর পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে মুছলিহীন কুলাঘাট ইউনিয়ন শাখা লালমনিরহাটের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

 মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ্ব মাওলানা মোঃ আতিকুর রহমান, খতিব, কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ লালমনিরহাট।
 আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা মোঃ আব্দুর রহমান,খতিব, কুলাঘাট বাজার, কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ,সদর লালমনিরহাট। 
 মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন জনাব মোঃ ইদ্রিস আলী, চেয়ারম্যান, কুলাঘাট ইউনিয়ন পরিষদ লালমনিরহাট।

 বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন
 আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল বাতেন রতন, সাধারণ সম্পাদক মুছলিহীন লালমনিরহাট শাখা।   
আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল খালেক, কুলাঘাট, সদর লালমনিরহাট।
 জনাব মোঃ মতিয়ার রহমান, কোষ্যক্ষ কুলাঘাট বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ।
 জনাব মোঃ হামিদুর রহমান ভেন্ডার কুলাঘাট, লালমনিরহাট।
 জনাব মোঃ  মহসীন আলী টিটু ৫ নং ইউপি সদস্য, কুলাঘাট ইউনিয়ন পরিষদ, লালমনিরহাট।
জনাব মোঃ মাহাতাব আলী কুলাঘাট লালমনিরহাট।

 আরজগুজারে, জনাব মোঃ জোবাইদুল ইসলাম জোবেদ, প্যানেল চেয়ারম্যান কুলাঘাট ইউনিয়ন পরিষদ লালমনিরহাট।

আশাশুনি উপজেলা চেয়ারম্যানের আয়োজনে ইফতার

আশাশুনি উপজেলা চেয়ারম্যানের আয়োজনে ইফতার

আহসান  উল্লাহ  বাবলু আশাশুনি  সাতক্ষীরা  প্রতিনিধি :স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আশাশুনি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মোস্তাকিম এর আয়োজনে ইফতার অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলা চেয়ারম্যানের বাসভবনে এ ইফতার অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। ইফতার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল হুসেইন খাঁন, থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ  গোলাম কবির,প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মিজানুর রহমান, সহকারী কৃষি কর্মকর্তা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু প্রমূখ। ইফতার অনুষ্ঠানে মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে বাংলাদেশসহ বিশ্বের মানবজাতিকে সুরক্ষার লক্ষ্যে দোয়া করা হয়।

আশাশুনিতে স্ত্রীর অধিকার পেতে স্বামীর বাড়িতে অনশন

আশাশুনিতে স্ত্রীর অধিকার পেতে স্বামীর বাড়িতে অনশন

আসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধি: আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের ফকরাবাদে স্ত্রীর অধিকার পেতে জেসমিন সুলতানা প্রিমা (২৭) তার স্বামীর বাড়ীতে অনশনে বসেছেন। (৩০ এপ্রিল) শুক্রবার দুপুরে তার স্বামী শারিউল্লাহ বাহার এর বাড়িতে দুপুর ১২টা থেকে অবস্থান করছে বলে জানা যায়। মেয়েটি বাড়ীতে অবস্থানের পর পরই ছেলে ওই বাড়ী থেকে কৌশলে পালিয়ে যায়।

মেয়েটি জানায়, প্রেমের সম্পর্কের কারণে সে তার প্রথম স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে ২০১৮ সালে। ফকরাবাদ গ্রামের মোঃ শাহজাহান আলী সরদারের ছেলে শারিউল্লাহ (২৬) এর সাথে ইসলামীক শরিয়ত মোতাবেক কাজীর মাধ্যমে বিয়ে হয় বড়দল ইউনিয়নের জামাল নগর গ্রামের ফারুক গাজী মেয়ে জেসমিন সুলতানা প্রিমার। বিয়ের পর তারা ঢাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বেশ কিছুদিন বসবাস করেন। বিয়ের এক মাস পর তার স্বামী তাকে না বলে ভাড়া বাসায় তাকে ফেলে রেখে চলে আসে। পরবর্তীতে সে তার স্বামীর বাসায় এলে তার শশুর, শ্বশুড় ও ভাই ভাইপোরা সহ বাড়ীর লোকজন তার সাথে খারাপ ব্যবহার করে এবং বেদম মারপিট করে তাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। এ নিয়ে গত আনুমানিক এক মাস আগে থানা পুলিশের মাধ্যমে সামাজিক বিচার-শালিসী হলেও তারা তাকে বাসায় তুলছে না। এজন্য কোন উপায়ন্তর না পেয়ে স্ত্রীর অধিকার আদায়ে আজ স্বামীর বাড়ীতে অবস্থান করেছেন এবং তা মিমাংসা না হওয়া পর্যন্ত এখানেই অবস্থান করবেন বলে তিনি জানান। এ বিষয়ে ছেলের বাবা শাহজাহান সরদার জানান, আমি কিছু জানি না। যখন জানতে পারি জানুয়ারি মাসের ২২ তারিখে কে বা কারা প্রলোভন দেখিয়ে ছেলেকে ঢাকায় নিয়ে গেছে। ঢাকায় যাওয়ার পর আমি যাচাই-বাছাই করে জানতে পারলাম আমার ছেলের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে। সেখানে যে একটা নোটারি পাবলিকের একটা এক লক্ষ টাকার দেনমোহরের কাগজ ৮০ হাজার টাকা নগদ দেখলাম তাতে তারিখ দেওয়া আছে ৩৩ বছর। এছাড়া আমি খোঁজখবর নিয়ে দেখলাম তার ভাইকে দিয়ে তাকে কৌশল করে ঢাকায় নিয়ে গিয়ে তার মোবাইল ফোনটি কেড়ে নেয় এবং তাঁকে বিভিন্ন রকমের হুমকি দিয়ে বিয়ে করাতে রাজি করে। তখন আরও জানতে পারলাম ১৮ বছর ছয় মাসের জায়গায় ৩৩ বছর কাগজে লেখা। আর ছেলের বয়স ৩৩ বছর ৭ মাস সেখানে লেখাআছে ২৭ বছর। খোঁজখবর নিয়ে আরও জানতে পারি এর আগে ওই মেয়ের আনুলিয়া ইউনিয়নের বিছট গ্রামে বিয়ে হয়। সেই ঘরের একটা মেয়ে সন্তানও আছে তার বয়স (১৪)। এখন সে আমার বউমা না। এছাড়া এটা আমার ছেলের বাড়ি না আমার বাড়ি আমি তাহাকে গ্রহণ করব না।

পটিয়ার কুসুমপুরা ইউনিয়নে এাণ সামগ্রী বিতরণ করলেন বদিউল আলম

পটিয়ার কুসুমপুরা ইউনিয়নে এাণ সামগ্রী বিতরণ করলেন বদিউল আলম

সেলিম চৌধুরী স্টাফ রিপোর্টারঃ-মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে পটিয়ার কুসুমপুরা ইউনিয়নে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।এতে প্রধান অতিথি বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ বদিউল আলম।

সভাপতিত্ব করেন প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা আবদুস ছালাম এবং সঞ্চালনা করেন পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুর রহিম চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা দেশরত্ন পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব শাহজাহান চৌধুরী, কুসুমপুরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা মোহাম্মদ কুতুব, নুরুল ইসলাম বুলু, দিদারুল আলম, মো: করিম চৌধুরী, মো: কাসেম, কোরবান আলী, নজরুল ইসলাম, যুবনেতা তৌহিদুল আলম জুয়েল, সালাউদ্দীন ইমরান, জয়নাল আবেদিন ফরহাদ, সাইফুল ইসলাম জুয়েল, বাদশা মিয়া, মো: জসিম, ছাত্রনেতা সাজ্জাদ হোসাইন, মো: মিজান, মো: মহিউদ্দিন, মো: সাগর প্রমূখ.

সন্দ্বীপে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, আব্দুল কাদের মিয়ার অর্থায়নে খাদ্য সামগ্রী বিতরন

সন্দ্বীপে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ,  আব্দুল কাদের মিয়ার অর্থায়নে খাদ্য সামগ্রী বিতরন
সন্দ্বীপে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ,  আব্দুল কাদের মিয়ার অর্থায়নে খাদ্য সামগ্রী বিতরন
মাঈন উদ্দীন আল আকাশ, চট্টগ্রাম - সন্দ্বীপ প্রতিনিধিঃ সন্দ্বীপ উপজেলায় নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি,জেনারেল সেক্রেটারী বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ইউএসএ এবং আব্দুল কাদের মিয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, বিশিষ্ট সমাজসেবক,দানবীর হাজী আব্দু্ল কাদের মিয়ার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে  করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন নিন্ম আয়ের মানুষের মাঝে  নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী  বিতরন করা হয়েছে।

আজ ৩০ এপ্রিল আলহাজ্ব আব্দুল কাদের মিয়া ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনায় বাউরিয়া ইউনিয়নে ওনার পিতা মাতার নামে প্রতিষ্ঠিত আলহাজ্ব আমেনা মুস্তাফিজ কুটিরে এ খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়। খাদ্য সামগ্রি বিতরনের প্রাক্কালে এক দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন পৌরসভা নুর আহাম্মদিয়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা নুর ইসলাম।

উক্ত খাদ্য সামগ্রি বিতরন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন  সাবেক ব্যাংকার ও সিবিএ উত্তর জেলার সহ সাধারন সম্পাদক এহতেশাম মিনার, ফাউন্ডেশনের সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন তারা,সাধারন সম্পাদক মোঃ জামসেদ,যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোঃ সাইফুল ইসলাম,স্থানীয় মসজিদ কমিটির সভাপতি ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ মনির ইসলাম প্রমুখ। 

উক্ত খাদ্য সামগ্রী নিতে আসা দরিদ্র অসহায় ও নিন্ম আয়ের মানুষগুলো জানান বর্তমান লকডাউন পরিস্থিতি ও পবিত্র মাহে রমজানের সময় আমরা অনেক অভাব অনটনের মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছি। এ সময় কাদের মিয়ার এ খাদ্য সামগ্রী আমাদের অনেক উপকারে আসবে, টানা পোড়েনের এ সময় এ সহযোগিতা পেয়ে আমাদের মাঝে কয়েকদিনের জন্য স্বস্থি মেলেছে, আল্লাহ ওনাকে হায়াত দারাজ করুক এবং ওনার দানের হাত আরো প্রসারিত করুক।

এছাড়াও এলাকার সুশীল সমাজের দুইজন প্রতিনিধি এহতেশাম মিনার ও মোঃ মনির ইসলাম জানান আব্দুল কাদের মিয়া পুরো সন্দ্বীপে মসজিদ,মাদ্রাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সহযোগিতা করে আসছেন দীর্ঘ অনেক বছর ধরে, অনেক মসজিদ মাদ্রাসায় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওনার আর্থিক সহযোগিতায় এসি স্থাপন, বিদ্যুৎ সংযোগ, সৌর প্যানেল স্থাপন সহ সেগুলোর অবকাঠামোগত উন্নয়ন, এলাকায় গরীব,দুঃস্থ, অসহায়দের চিকিৎসা,গরীব মেয়ের বিয়ে সহ সকল কাজে নিরলস দান করে যাচ্ছেন। এছাড়াও এলাকার ৪০/৫০ টি পরিবারের সারা বছর চিকিৎসা ও খাদ্য সহায়তা বাবদ প্রতিমাসে টাকা পাঠান তিনি। সন্দ্বীপে অনেক ধনী ব্যক্তি থাকলেও তারা এলাকার মানুষের কথা ভাবেনা, কিন্তু এ ব্যাপারে তিনি সম্পুর্ন ব্যতিক্রম তিনি হৃদয়ের টান ও শেকড়ের টানে সুদুর আমেরিকায় থেকেও নিজ পরিবারের মতো সকলের কথা ভাবেন। আমরা তার এ সুন্দর মানষিকতার জন্য এলাকার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। এবং ওনার সুস্থ, সুন্দর দীর্ঘজীবন কামনা করছি। 

অন্যদিকে আজ এ ত্রান সামগ্রী  বিতরন উপলক্ষে  প্রবাস থেকে সন্দ্বীপ বাসীকে পবিত্র মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সেই দানশীল ব্যক্তিত্ব  আব্দুল কাদের মিয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি,জেনারেল সেক্রেটারী বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ইউএসএ,বিশিষ্ট সমাজসেবক, ব্যবসায়ী  হাজী আব্দুল কাদের মিয়া। এছাড়াও সকল সন্দ্বীপবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

পাঁচবিবি তে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষন! আটক ১

পাঁচবিবি তে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষন! আটক ১

মোঃ আরিফুল ইসলাম অনিক জয়পুরহাট (পাঁচবিবি) উপজেলা প্রতিনিধিঃ জয়পুরহাট জেলার পাঁঁচবিবি উপজেলার কুয়াতপুর গ্রামের আবু সুফিয়ান(২৭)পিতা-আব্দুল সালাম কে ধর্ষনের অভিযোগে গ্রেফতার করেছে পাঁচবিবি থানা পুলিশ।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়,ওই যুবক দীর্ঘদিন ধরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন ভাবে কু প্রস্তাব দিয়ে আসছিল।মেয়েটি রাজি হচ্ছিল না। বিয়ের কথা বলে গত ২৫ মার্চ কুয়াতপুর গ্রামের জনৈক আব্দুল জোব্বারের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষন করে।তিন দিন পর বিয়ের চুড়ান্ত আশ্বাস  দিয়ে  শহরের কাজি অফিসে নিয়ে পুনরায় ধর্ষন করে।

পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পলাশ চন্দ্র দেব জানান,ভুক্তভোগীর বাবা বাদি হয়ে থানায় মামলা করার পর গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রাতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়।গ্রেফতারের পর তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

নওগাঁর আত্রাইয়ে ছেলের হাতে মা খুন

নওগাঁর আত্রাইয়ে ছেলের হাতে মা খুন



 
মোঃ ফিরোজ হোসাইন রাজশাহী ব্যুরো ঃ নওগাঁর আত্রাইয়ে ছেলের হাতে বিধবা মা খুন হয়েছে। নিহত জাহিদা বেওয়া (৬৫) দীঘা পূর্ব পাড়া গ্রামের মৃত হারান প্রামানিক স্ত্রী। ঘাতক ছেলে জাহিদ (৪৫)ও স্ত্রী রহিমা (৩৫) আটক করেছে আত্রাই থানা পুলিশ।
ঘটনা ঘটেছে সকাল ৮টায় আহসানগঞ্জ ইউনিয়নের দীঘা পুর্ব পাড়া গ্রামে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আত্রাই থানা সূত্রে জানা যায়,  ছেলে জাহিদ হোসেন ও তার স্ত্রী রহিমা সাথে  পারিবারিক কলহের জের ধরে আজ সকাল ৮টার দিকে তর্ক বির্তকের এক পর্যায়ে ছেলে ও বউ মিলে মসলা বাটা সীলপাটা দিয়ে মায়ের মাথায় সজোর আঘাত করলে মা লুটিয়ে পরে। নাক মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়ে ঘটনা স্থলে মা মারা যায়। উপস্থিত স্থানীয়রা ছেলে ও তার স্ত্রীকে আটক করে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ মায়ের লাশ উদ্ধার করে  ও ছেলে ও স্ত্রী আটক থানায় নিয়ে আসে।

এব্যাপারে আত্রাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন পারিবারিক কলহের জেরে ঘটনাটি ঘটেছে। নিউজটি করার সময় মামলার প্রস্ততি চলছে। অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

মোংলায় নাগরিক সমাজের সমাবেশে বক্তারা, "পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর জীবাশ্ম জ্বালানিতে এডিবি'র বিনিয়োগ বন্ধ কর"

মোংলায় নাগরিক সমাজের সমাবেশে বক্তারা, "পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর জীবাশ্ম জ্বালানিতে এডিবি'র বিনিয়োগ বন্ধ কর"

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা    
পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর জীবাশ্ম জ্বালানিতে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক ( এডিবি ) এর বিনিয়োগ অবশ্যই বন্ধ করতে হবে। বাংলাদেশের জ্বালানী খাতে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক এর বিনিয়োগ শুধু দেশকে দেনায় জর্জরিত করছে না, বরং পরিবেশ ও জলবায়ুর মারাত্মক ক্ষতিসাধন করছে। স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত এডিবি বাংলাদেশের জ্বালানি খাতে প্রায় ৬.১৩ বিলিয়ন ডলার বা প্রায় ৫২ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে যার ৯৮ ভাগই জীবাশ্ম জ্বালানি খাতে। ৩০ এপ্রিল শুক্রবার সকালে মোংলার চরকানা পশুর নদীর পাড়ে মোংলা নাগরিক সমাজ ও বাংলাদেশ বৈদেশিক দেনা বিষয়ক কর্মজোট ( বিডব্লিউজিইডি ) আয়োজিত এডিবিথর আসন্ন বার্ষিক সাধারণ ( ৩-৫ মে, ২০২১ ) সভাকে সামনে রেখে মানববন্ধন চলাকালে সমাবেশে বক্তারা একথা বলেন।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় মানববন্ধন চলাকালে সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মোংলা নাগরিক সমাজের আহ্বায়ক পরিবেশ কর্মী মোঃ নূর আলম শেখ। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মোংলা নাগরিক সমাজের নেতা গীতিকার মোল্লা আল আল মামুন, সাংবাদিক রিয়াজুল আলীম, বাউল আব্দুস সালাম, উম্মে সালমা জুঁই প্রমূখ। সমাবেশে বক্তারা আরো বলেন  বিগত ১০ বছরে সবমিলিয়ে ৯,৪০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ১২টি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিনিয়োগ করেছে এডিবি যা প্রতিবছর গড়ে ১৯.৩ মিলিয়ন টন কার্বন নির্গমনের জন্য দায়ী। আগামী ৩-৫ মে ২০২১ তারিখে, এডিবিথর বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এবং এই সভায় এডিবিথর নতুন জ্বালানি নীতি বিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। প্যারিস চুক্তিতে স্বাক্ষরকারী সংস্থা হিসেবে পৃথিবীর তাপমাত্রা বৃদ্ধি ১.৫ ডিগ্রির মধ্যে রাখার জন্য অবশ্যই এডিবির জ্বালানি নীতিতে সুস্পষ্ট এবং বাস্তবসম্মত প্রতিফলন আনতে হবে। উল্লেখ্য এডিবিথর অর্থায়নে বাস্তবায়িত বেশিরভাগ প্রকল্পে স্থানীয় পরিবেশ ও মানুষের জীবন-জীবিকার বিষয়টি উপেক্ষা করা হয়েছে। অনৈতিক ভাবে জমিদখল, ন্যায্য ক্ষতিপূরণ না দেয়া, সাধারণ মানুষকে হয়রানি এবং বৈশ্বিক জলবায়ু সমস্যাকে পাত্তা না দিয়েই এডিবিথর বিনিয়োগে বেশ কয়েকটি বিদ্যুৎ প্রকল্প চলছে বলে দাবি করেন বক্তারা। বক্তারা বাংলাদেশের শতভাগ নবায়নযোগ্য জালানি নিশ্চিত করার জন্য এডিবিথর উদ্যোগ নেয়ার জোরালো আহ্বান জানান।

চমক দেখাতে উল্টো নিউজ ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী

চমক দেখাতে উল্টো নিউজ ক্ষুদ্ধ  এলাকাবাসী

মোহনগঞ্জ (নেত্রকোণা) প্রতিনিধিঃ নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে চমক দেখাতে গিয়ে "নির্মাণ কাজ শেষের আগেই ঘর ভেঙ্গে মাটির সাথে মিশে গেছে"   এমন  উল্টো নিউজ করেছেন এক দৈনিক পত্রিকার সাংবাদিক। এতে ক্ষুদ্ধ হয়েছেন ঘর মালিক জুয়েল রবিদাস, তার বাবা লাল মহন রবিদাস সহ এলাকা বাসী। ঘটনাটি ঘটেছে বড়তলী বানিহারী ইউনিয়নের বসন্তিয়া গ্রামে। জানা গেছে, নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে হতদরিদ্র ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জন্য পাঁচটি সেমিপাকা বসত ঘর নির্মাণ করা হয়েছে । এতে একটি ঘর বসন্তিয়া গ্রামের জুয়েল রবিদাসের নামে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে । ঘরটি আধা নির্মিত হওয়া অবস্থায়  ঘরের দেয়ালে একপাশে সামান্য ফাটল দেখা দেয়ায় সেটি ভেঙ্গে পুনরায় ঘরটি নির্মাণ করে দিচ্ছে বলে জানান জুয়েল রবিদাসের বাবা লাল মহন রবিদাস। জুয়েল রবিদাসের স্ত্রী দিপালী রবিদাস বলেন, ঘরের দেয়ালে একটু সামান্য ফাটল দেখা দিতেই কর্তৃপক্ষ সেটি ভেঙে পাশেই আবার নতুন ঘর করে দিচ্ছেন। এলজিইডি'র মোহনগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী আলমগীর হোসেন জানান, কাজ চলমান অবস্থায় ঘরের দেয়ালে সামান্য ফাটল দেখা দেয়। পরে সাথে সাথেই আমরা সেটা ভেঙে আবার নতুন ঘর করে দিচ্ছি।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান বলেন, বৃহস্পতিবার জুয়েল রবিদাসের নির্মিত ঘর পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রসাশক কাজী মো. আব্দুর রহমান । সেখানে ঘর ভেঙ্গে পড়ার কোনও ঘটনা ঘটেনি।

মহান মে দিবসে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের বানী, শ্রমিকের অধিকারই মানবাধিকার

মহান মে দিবসে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের বানী, শ্রমিকের অধিকারই মানবাধিকার

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ মহান মে দিবস-২০২১ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কৃষিবিদ জহির উদ্দীন মবু ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আল মাহমুদ পলাশ এক বিবৃতি দিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় শ্রমজীবী ও পেশাজীবী মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার পক্ষে সমাজের সকল মানুষকে এগিয়ে এসে মেহনতী জনতার সাথে একাত্ন হওয়ার জন্য বিনীতভাবে আহবান জানিয়েছেন। সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আজকের এই দিনে সকল মেহনতী মানুষের প্রতি তাদের শ্রদ্ধা ও ভালবাসা জানান।

বাণীতে নেতাদ্বয় আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার শ্রমিকদের মজুরিবৃদ্ধিসহ সার্বিক কল্যান ও জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে কাজ করছে। এর সুফল পাচ্ছে দেশের মেহনতি শ্রমজীবী মানুষ।বর্তমানে বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতে সকলকে স্বাস্থ্য বিধি ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার জন্য সকল শ্রমজীবী ও পেশাজীবীদের প্রতি আহবান জানিয়ে মহান মে দিবস উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের পক্ষ থেকে দেশের শ্রমজীবী মানুষকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিক সহায়তা ও টিকাদান কর্মসুচী মানুষকে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখিয়েছে , হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিক সহায়তা ও টিকাদান কর্মসুচী মানুষকে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখিয়েছে  , হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি
অনুদান তুলে দিচ্ছেন এমপি ইকবালুর রহিম  
মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, পৃথিবীর এখনও উন্নত দেশগুলো ভ্যাকসিন দিতে পারেনি সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দুরদর্শীৃ কুটনৈতিক তৎপরতার কারনে এবং বাংলার মানুষকে ভালবাসার কারনে তিনি ২০টি দেশের মধ্যে প্রথম বাংলাদেশের মানুষকে করোনা থেকে রক্ষার জন্য ভ্যাকসিন প্রদান করেন। পর্যায় ক্রমে দেশের সকল মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া হবে বলে আশস্ব করেছেন। করোনকালে অনেক মানুষ বেকার ও কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এদেরকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খাদ্য সহায়তা ও  অর্থ নৈতিক সহায়তা দিয়ে মানবিক দৃষ্টান্তের নজির স্থাপন করেছেন। হুইপ ইকবালুর রহিম সবাইকে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহবান জানান।
তিনি বলেন, জনগন সচেতন না হলে করোনার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া খুব কঠিন। তিনি করোনার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য মহান আল্লাহতালার কাচে দোয়া প্রার্থনা করেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ূ কামনা করেন ও করোনায় যারা মৃত্যুবরন করেছেন তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন। তিনি আরও বলেন,  দিনাজপুরের মানুষ ২৪ ঘন্টা বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত।  প্রচন্ড গরমের হাত থেকে রক্ষা পেয়ে সেহেরী এবং ইফতার করছেন। মসজিদে নামাজ আদায় করছেন। তিনি শেখ হাসিনা পর্যায়ক্রমে দেশের প্রত্যেকটি ভুমিহীন ও শ্রমজীবী মানুষকে মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাড়ীর ব্যবস্থা করে দিবেন। তিনি করোনা মোকাবেলায় চিকিৎসক, প্রশাসন, সেনাবাহিনী, পুলিশসহ সকল স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।
৩০ এপ্রিল শুক্রবার দিনাজপুর মহারাজা গিরিজানাথ উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্থ কর্মহীন পরিবহন শ্রমিকদের মাঝে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে উপহার (খাদ্য সহায়তা) বিতরন কালে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি এসবকথা বলেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, বিপিএম, পিপিএম (বার), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শচিন চাকমা, দিনাজপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ইমদাদ সরকার, সদর উপজেলা সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুল কুদ্দুস, নির্বাহী অফিসার এসএইচ এম মাগফুরুল হাসান আব্বাসী, ভাইস চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম সোহাগ, শহর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রায়হান কবীর সোহাগ, সাধারন সম্পাদক এস এম খালেকুজ্জামান রাজু, মটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ রফিক, সাধারন সম্পাদক ফজলে রাব্বীসহ অন্যান্যরা।





দৌলতপুরে আবারো আল সালেহ লাইফ লাইনের পক্ষ খাদ্য সামগ্রী প্রদাণ

দৌলতপুরে আবারো আল সালেহ লাইফ লাইনের পক্ষ  খাদ্য সামগ্রী প্রদাণ

চঞ্চল হোসাইনঃ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে অসহায় ও সুবিধা বঞ্চিত মানুষের মাঝে আল-সালেহ লাইভ লাইন এন্টারপ্রাইজ বাংলাদেশ লিঃ এর পক্ষ থেকে চাল, ডাল, আলু, পেয়াজ, তেল সহ সর্বপ্রকার খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। আজ সকাল ১০ টার সময় দৌলতপুর তারাগুনিয়া বাজার, জয়রামপুর বাজার, ফারাকপুর গ্রামে মোটঃ ১২০০ টি পরিবারের মাঝে এ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, আল-সালে লাইফ লাইন এন্টারপ্রাইজ বাংলাদেশ লিঃ কোম্পানির প্রকল্প পরিচালক বিশিষ্ট সমাজ সেবক হাজী হুমায়ুন কবির, প্রজেক্ট ম্যানেজার মোঃ মামুনুর রশিদ সহ অন্যান্যরা।

বিশিষ্ট সমাজ সেবক হাজী হুমায়ুন কবির বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ মধ্যে অসহায় মানুষের মাঝে খাবার সামগ্রী বিতরণ করলাম আজ ১২০০ পরিবার এর মধ্যে। এ সময় তিনি আরো বলেন, সারাবিশ্বে মহামারী করোনাভাইরাস এর শুরু থেকে আল-সালেহ লাইভ লাইন এন্টারপ্রাইজ বাংলাদেশ লিঃ এর পক্ষ থেকে এযাবৎ পর্যন্ত ৮ হাজার পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, আলু, পেয়াজ, তেল সহ সর্বপ্রকার সহযোগিতা আমরা করেছি।

মোহনগঞ্জ প্রেসক্লাবের উদ্যোগে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

মোহনগঞ্জ প্রেসক্লাবের উদ্যোগে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

আজহারুল ইসলাম মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি নেত্রকোনা: নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ প্রেসক্লাবের উদ্যোগে ক্লাবের সদস্যদের মধ্যে করোনা সুরক্ষায় পিপিই,মাস্ক,প্যাড,কলম ও অন্যান্য উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। 

শুক্রবার বেলা এগারটায় প্রেসক্লাব কার্যালয়ে ক্লাবের সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিবের সহযোগীতায় সাধারণ সম্পাদক মাসুম আহমেদ এ উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন।

"আমার দেশ মুক্ত স্কাউট গ্রুপ " এর উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ

"আমার দেশ মুক্ত স্কাউট গ্রুপ " এর উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ

রহমতউল্লাহ ,নওগাঁ  প্রতিনিধি: নওগাঁয় "আমার দেশ মুক্ত স্কাউট গ্রুপ " এর উদ্যোগে অসহায় ও দুঃস্থদের মাঝে  ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) সকাল ১০ টায় চকদেব মাস্টার পাড়ায় সোস্যাল ইনোভেশনটিমের সহযোগিতায় এই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। 

উক্ত প্রোগ্রামে উপস্থিত ছিলেন, উপদেষ্টা এস. এম. শামসুল আলম, উপদেষ্টা মো. খালেকুজ্জামান আনসারী, গ্রুপ সম্পাদক/ইউনিট লিডার মো. আতিকুর রহমান, নুরজাহান বেগম। 

আরো উপস্থিত ছিলেন, মো. জাহাঙ্গীর আলম, আব্দুল মালেক, মো.অপু, শেখ রাসেল, মো. ফাহিম ফয়সাল প্রমূখ। ২০০ টি পরিবারের মাঝে দুই শত টাকা, ৫ কেজি চাল ও ১ কেজি ডাল বিতরণ করা হয়।

হিজরা সম্প্রদায়ের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত-৭

হিজরা সম্প্রদায়ের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত-৭

লাতিফুল আজম কিশোরগঞ্জ(নীলফামারী) প্রতিনিধি: নীলফামারী কিশোরগঞ্জ বাজারে তৃতীয় লিঙ্গের (হিজরা)সম্প্রদায়ের দু' গ্রুপের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।এ সময়  ধাওয়া পাল্টা ধাওয়াায় ৭ জন আহত হয়েছে।

 জানা গেছে,বৃহস্পতিবার রাত ৮টার সময় কিশোরগঞ্জ বাজারে চাঁদা তুলতে আসে রংপুর জেলার তারাগঞ্জ উপজেলার বেলতলী এলাকার তৃতীয় লিঙ্গের সদার্র রানা (৫০) ও তার দলবল। এ সময় নীলফামারী জেলার জলঢাকা বাজার এলাকার তৃতীয় লিঙ্গের দলনেত্রী পূর্ণিমা (৫০) ও তার দলবল তাদের বাঁধা দিলে উভয় গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় জলঢাকার দলনেত্রী পূর্ণিমা (৫০)সহ ৭ জন আহত হন।  এদেরকে কিশোরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।দলনেত্রী পূর্ণিমার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  রাতেই স্থানান্তর করা হয়। সংবাদ পেয়ে কিশোরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করে  ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ সময় উৎসুক জনতার ভিড়ে বাজার এলাকায় হইহুল্লোর শুরু হয়। জলঢাকা উপজেলার তৃতীয় লিঙ্গের শ্যামলী  বলেন, আমরা রংপুর জেলায় চাঁদা তুলতে যাই না, তারা কেন আমাদের জেলায় চাঁদা তুলতে আসে । এ নিয়ে বাঁধা দিলে তারা আমাদের উপর চড়াও হয়ে মারধর শুরু করেন। এ সময় গুরুতর আহত দলনেত্রী পূর্ণিমার কাছ থেকে ৮০ হাজার টাকা,মোবাইল সেট সহ গহনা ছিনতাই করে তারা মাইক্রোবাস যোগে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল সাথে কথা হলে, তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ব্যাপারে থানায় কেউ কোন অভিযোগ করেনি।

কুলাউড়ায় দেড়শো পরিবারকে রমযানের খাদ্য সহায়তা

কুলাউড়ায় দেড়শো পরিবারকে রমযানের খাদ্য সহায়তা

মোঃ রেজাউল ইসলাম শাফি,কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় স্থানীয় একটি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দেড়শো অসহায় পরিবারকে রমযানের খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে। 
পৌর শহরসহ কুলাউড়া বিভিন্ন এলাকার দেড়শোটি পরিবারকে স্থানীয় শাহ্ সৈয়দ রাশীদ আলী ফাউণ্ডেশনের তত্ত্ব্র এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

ফাউণ্ডেশনের উপদেষ্টা মোক্তাদির হোসেন জানান, প্রবাসীদের সংগঠন মৌলভীবাজার ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশন অব নর্থ আমেরিকা ইনকের উদ্যোগে  ও শাহ্ সৈয়দ রাশীদ আলী ফাউণ্ডেশনের সার্বিক তত্বাবধানে এই খাদ্য সামগ্রী উপজেলার দেড়শো পরিবারের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। করোনার লকডাউনের প্রভাবে রমজানে বিভিন্ন শ্রমজীবি মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েন। এতে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন শ্রমজীবি মানুষেরা। সেসব মানুষ থেকে দেড়শ পরিবারকে ফাউণ্ডেশনের মাধ্যমে বাছাই করা হয়। মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত এই খাদ্য সামগ্রী ওই সকল পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।ফাউণ্ডেশনের পক্ষ থেকে আমরা গৃহহীন মানুষকে ঘর নির্মাণ, বেকার মানুষকে স্বনির্ভর করতে এবং দরিদ্র অসুস্থ মানুষকে চিকিৎসা সহায়তা দিয়ে আসছি। সহযোগিতা করার পাশাপাশি বিভিন্ন দুর্যোগে ত্রাণ ও আর্থিক সহায়তা ফাউণ্ডেশনের কার্যক্রম অব্যাহত আছে।

খাদ্য সহায়তা পর্যায়ক্রমে বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ফজলুল হক খান সাহেদ, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের নারী সদস্য শিরীন আক্তার চৌধুরী মুন্নি, কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি বদরুজ্জামান সজল,  নিউ নেশন প্রতিনিধি মছব্বির আলী, পৌরসভার সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর তাসলিমা সুলতানা মনি, প্রিয় বাংলার সম্পাদক নাজমুল বারী সোহেল, রাশিদ আলী ফাউন্ডেশনের সদস্য পারুল মিয়া ও হাসিনা আক্তার ডলি, আলী আমজদ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সৈয়দ মোহাম্মদ আলী,  লংলা রাশিদিয়া শমসেরিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক হাফিজ আব্দুর নুর ও হাফিজ আব্দুল মতিন, শ্রমিক নেতা শফিকুর রহমান,  সংবাদকর্মী রুবেল বক্স পাবেল, লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘ, মৌলভীবাজার শাখার সভাপতি আজহার মুনিম শাফিনসহ ফাউণ্ডেশনের সদস্যবৃন্দ।

খাদ্য সামগ্রীর প্রতিটি প্যাকেটে ৩ কেজি চাল,৩ কেজি আলু, ২ কেজি পেয়াজ, ১ কেজি লবন, ১ লিটার সয়াবিন তেল, ১কেজি ছোলা, ১ কেজি বুটের ডাল, ১ কেজি মসুরি ডাল, আধা কেজি রসুন দেওয়া হয়।

গাংনীতে সড়ক দুর্ঘটনার বৃদ্ধ নিহত,টাকা দিয়ে মীমাংসার চেষ্টা

গাংনীতে সড়ক দুর্ঘটনার বৃদ্ধ নিহত,টাকা দিয়ে মীমাংসার চেষ্টা

তানভীর আহমেদ, মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধিঃমেহেরপুরের গাংনীতে সড়ক দুর্ঘটনায় সাতু মন্ডল(৭০) নামে বৃদ্ধ পুলিশের নারী মোটরসাইকেল চালকের ধাক্কায় নিহত হয়েছে।আজ বৃহস্পতিবার সন্ধা সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার যুগিন্দা গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে।নিহত সাতু মন্ডল মেহেরপুর  উপজেলার যুগিন্দা গ্রামের খ্রিষ্টান পাড়ার ওসরু মন্ডলের ছেলে। মোটরসাইকেলচালক পুলিশ কনস্টেবল সিমা খাতুন মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি গ্রামের হযরত আলীর মেয়ে। সিমা খাতুন বর্তমানে ঝিনাইদহ জেলা পুলিশে কর্মরত রয়েছে।


স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, নারী পুলিশে পুলিশের কনস্টেবল সিমা খাতুন তার ভগ্নিপতি জুগিন্দা গ্রামের কাশেমের ছেলে মিনারুল ইসলাম কে দেখতে আসলে বাসায় ফিরে যাওয়ার সময় সাতু মন্ডল কে ধাক্কা দিলে রাস্তায় পড়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এ সময় ওই নারী কনস্টেবলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলেও বৃদ্ধার লাশ টাকা দিয়ে মীমাংসার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী। স্থানীয়রা আরো জানান, ওই নারী কনস্টেবল একই গ্রামের মৃত খোদা বক্স এর ছেলে সালাউদ্দিনের আত্মীয় হয় তিনি গাংনী থানায় গিয়ে টাকা পয়সা দিয়ে মীমাংসার চেষ্টা চালাচ্ছেন।

এ বিষয়ে সালাউদ্দিন এর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, তার পরিবারের লোকজনকে নিয়ে আমরা থানায় গিয়েছিলাম। কোন লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি উত্তর দিতে গড়িমসি করেন। গাংনী থানার ওসি মোঃ বজলুর রহমান জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ দেয়নি লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মেহেরপুর জেলা পুলিশ সুপার এসএম মুরাদ আলি জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই পরিবারের পক্ষ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ পেলে আমাদের পক্ষ থেকে ভালো হয়। আমরা অনেক সময় দেখি সড়ক দুর্ঘটনার নিহতের পরিবারেরা অনেক সময় মীমাংসা করে ফেলে।উল্লেখ্যঃ সংবাদ লেখার আগ পর্যন্ত টাকা দিয়ে মীমাংসা করে লাশ সৎকার করার চেষ্টা চলছে

ভারতের মত বাংলাদেশ ভয়াবহ হতে পারে আমাদের সচেতনতার কোন বিকল্প নাই

ভারতের মত বাংলাদেশ ভয়াবহ হতে পারে আমাদের সচেতনতার কোন বিকল্প নাই

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।ইউরোপের দেশ ইটালি'তে প্রথম যখন ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়েছিল,পাশের দেশ স্পেনের মানুষ তখন ভেবেছিল-এটা ইটালির সমস্যা। তাদের কিছু হবে না, স্প্যানিশ'রা মনের আনন্দে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। এরপর একটা সময় দেখা গেলো ইটালির চাইতে স্পেনের অবস্থাই বেশি খারাপ হয়েছে।

ফ্রান্স যখন তাদের নাগরিকদের হাসপাতালে জায়গা দিতে পারছিল না, প্রতিদিন শত শত  মানুষ মারা যাচ্ছিলো, ঠিক তার পাশের দেশ ইংল্যান্ড তখন ভেবেছিল- এটা ফ্রান্সের সমস্যা তাদের কিছু হবে না। ওরা মনের আনন্দে ঘুরে বেড়াচ্ছিল কোন প্রস্তুতি ছাড়াই। এর ঠিক দুই সপ্তাহ পর ইংল্যান্ডের অবস্থা ফ্রান্সের চাইতেও খারাপ হয়েছে। সেই ধাক্কা ইংল্যান্ড আজও কাটিয়ে উঠতে পারেনি। অথচ সপ্তাহ দুয়েক আগে সতর্ক হয়ে যদি সঠিক প্রস্তুতি নিত, তাহলে হয়ত যেই পরিমাণ মানুষ এইসব দেশে মারা গিয়েছে তার অর্ধেককে বাঁচানো সম্ভব হতো। 

ভারতে প্রতিদিন মৃত্যুর তালিকা দীর্ঘ হচ্ছে, হাসপাতাল গুলো অক্সিজেন দিতে পারছে না। দলে দলে মানুষ হাসপাতালের সামনে বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছে। এইসব ভিডিও পুরো পৃথিবীতে এখন ছড়িয়ে পড়েছে। 

ভারতের পাশের দেশ হিসেবে আমরা বাংলাদেশিরা যদি ভেবে থাকি- আমাদের কিছু হবে না, তাহলে আমরা বোকার স্বর্গে বাস করছি। আমেরিকার অবস্থা খারাপ হবার পর তার ঠিক পাশের দেশ মেক্সিকোর অবস্থা এখন এতোটাই খারাপ, ওরা মানুষের শেষকৃত্য করার জায়গা পর্যন্ত দিতে পারছে না। 

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি যে দেশে'ই অনেক খারাপ হয়েছে, পরবর্তীতে তার পাশের দেশে এর প্রভাব হয়েছে তার চাইতেও ভয়াবহ। কারন তারা নিজেরা প্রস্তুত না হয়ে উল্টো অবহেলা করেছে। 

সময় থাকতে আমাদের সতর্ক ও প্রস্তুত হতে হবে, অক্সিজেন সরবরাহ বৃদ্ধি করার চেষ্টা করতে হবে। দরকার হয়- আলাদা করে কিছু টিম তৈরী রাখতে হবে জরূরী অবস্থা মোকাবেলায়, সর্বোপরি বর্তমান পরিস্থিতিতে অবশ্যই স্বাস্থ্য-বিধি মেনে চলতে হবে সবাইক, আমাদের সচেতনতার কোন বিকল্প নেই।

ফলোআপঃগাংনীতে অপহরণের সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগে রামনগরের জান্নাত পুলিশের হাতে আটক

ফলোআপঃগাংনীতে অপহরণের সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগে রামনগরের জান্নাত পুলিশের হাতে আটক

তানভীর আহমেদ, মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধিঃ মেহেরপুরের গাংনীতে অপহরণের সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগে রামনগরের মটরসাইকেল মেকানিক জান্নাতকে (২৬) আটক করেছে গাংনী থানা পুলিশ।  আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গাংনী থানার এসআই জহির রায়হান তার ফোর্স নিয়ে গাংনী   উপজেলার রামনগর গ্রাম থেকে তাকে আটক করে। আটককৃত জান্নাত ওই  গ্রামের দক্ষিণ(গোরস্থান) পাড়ার আজাদ আলী ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ই মার্চ মেহেরপুর গাংনী উপজেলা সহড়াতলা গ্রামের মৃত উজির আলীর ছেলে মিনারুল ইসলাম(৩৮) অপহরণ হয়। এ ঘটনায় মিনারুলের স্ত্রী বেবী নাজনীন বাদী হয়ে রামনগর গ্রাম আওয়ামী লীগের সভাপতি  মোহাম্মদ আলীর ছেলে রোকনুজ্জামান খোকন, সালোয়ার খাঁ এর ছেলে মিন্টুসহ ৬ জনকে আসামী করে একটি অপহরণ মামলা করে। ওই অপহরণ কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেট কারের মালিক মটরসাইকেল মেকানিক জান্নাত দাবী মিনারুলের স্ত্রীর।

এই অপহরণ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই জহির রায়হান জানান, এই মামলায় আসামী মিন্টুকে ইতোমধ্যে আটক করা হয়েছে। একজন আসামী কোর্টে আত্মসমর্পণ করেছে, আরেক আসামী হাইকোট থেকে জামিন নিয়েছে। রোকনুজ্জামান খোকন পলাতক রয়েছে। এছাড়া একজন আসামীর বাড়ি ভারতে। অপহরণ কাজে জান্নাতের গাড়ি ব্যবহার করা হয়েছে মর্মে তাকে আটক করা হয়েছে। 

গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রহমান জানান, জান্নাত এজাহার ভুক্ত আসামী নয়। এই অপহরণ কাজে তার গাড়ি ব্যবহার করা হয়েছে এমন অভিযোগ আছে। সে তদন্ত্বপূর্বক আসামী। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।পরে  তদন্ত্ব শেষে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

পটিয়া পৌরসভা জাতীয় শ্রমিকলীগ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন

পটিয়া পৌরসভা জাতীয় শ্রমিকলীগ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন

সেলিম চৌধুরী স্টাফ রিপোর্টারঃ-
 জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী এমপি ও তার পুত্র শারুন চৌধুরী'র বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদে পটিয়া পৌরসভা জাতীয় শ্রমিকলীগ মানববন্ধন কর্মসূচি  পালন করে।  (২৯ এপ্রিল) বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা গেইটের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন  চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলী সহ সভাপতি পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোতাহারুল ইসলাম চৌধুরী,  চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা জাতীয় শ্রমিকলীগ সভাপতি নুরুল হাকিম।  এ মানববন্ধনে  সভাপতিত্ব করেন পটিয়া  পৌরসভা জাতীয়  শ্রমিকলীগ সভাপতি শফিকুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক মোজাম্মেল হক মাজু, শ্রমিকলীগ নেতা কলিমুর রহমান, বাবু চৌধুরী, আগুন চৌধুরী,  সুমন আলী চৌধুরী, মো: লিটন, প্রতাশ দাশ, আবু ছৈয়দ, আকতার হোসেন, নয়ন সেন, শিবু বিশ্বাস, জিল্লু রহমান, আবু তৈয়ব, আবু ছালেহ, জপুর, বাসেক, রুবেল, মাহবুর আলম, ইকবাল হোসেন, শহীদ প্রমুখ সভা বক্তারা বলেন সাংবাদিকদের কাজ হলো বস্তু নিষ্ট সংবাদ পরিবেশন করা। কিন্তু কিছু পএিকা ও ভুঁইফোঁড় অনলাইনে জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরী ও তার পুএ শারুন চৌধুরী বিরুদ্ধে কল্পকাহিনী সাজিয়ে পএিকার খাটতি বাড়াতে মনগড়া সংবাদ পরিবেশন করছে।  তিনি সংবাদের আসল বিষয়টি উদ্ঘাটন করার আহবান জানিয়ে বলেন,  পটিয়ার এমপি শামসুল হক চৌধুরী তার পুএ'র শারুন চৌধুরী'র মনগড়া সংবাদ পরিবেশন থেকে বিরত থাকার আহবান জানান।

মোহনগঞ্জে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ৫

মোহনগঞ্জে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ৫
মোহনগঞ্জে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ৫
আজহারুল ইসলাম মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি নেত্রকোনাঃ নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ওয়ারেন্ট ভুক্ত ৫ আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার উপজেলার বিভিন স্থানে অভিযান চালিয়ে আসীদের গ্রেফতার করা হয়। অভিযান পরিচালনা করেন মোহনগঞ্জ থানার এস আই মাজহারুল ইসলাম, সানোয়ার হোসেন, মমতাজ উদ্দিন, ও এ এস আই মোখলেছুর রহমান, আবু তাহের। 

গ্রেফতার কৃত আসামীরা হলেন উপজেলার সুয়াইর ইউনিয়নের ভাটি সুয়াইর গ্রামের ১.নুর আলী চৌধুরী, ২.নুর আলম চৌধুরী উভয় পিতা মৃতঃ উসমান চৌধুরী,  ৩.কামরুজ্জামান পিতাঃ শন্তু মিয়া,৪.মোজাম্মেল হক পিতাঃমোস্তাফা ও ৫.আঃজলিল পিতা মৃতঃভিমু মিয়া ।

করোনায় সীমিত আকারে শেকড় মাল্টিমিডিয়া'র ঈদ আয়োজন

করোনায় সীমিত আকারে শেকড় মাল্টিমিডিয়া'র ঈদ আয়োজন

যাযাবর পলাশঃ চলে এসেছে মুসলিম জাতির সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। আর তাই সংস্কৃতি অঙ্গনে শুরু হয়েছে তারই আমেজ। তবে মহামারী করোনার প্রভাবে বিনোদন জগত যেন কিছুতেই আগের রূপে ফিরতে পারছেনা। গত বছরের ন্যায় এবারও যেন আসছে সেই রঙহীন ঈদ। শ্যুটিং পাড়া গুলোতে নেই সেই চেনা জানা ব্যস্ততা। তারকারাও যেন অনেকটাই ঘরবন্দী। শ্যুটিং এ বাধা না থাকলেও করোনা থেকে নিজেকে নিরাপদ রাখতে ঘর থেকে বের হচ্ছেন না অনেকেই। কিন্তু তারপরও থেমে নেই ঈদের আয়োজন। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান গুলো সীমিত আকারে নিচ্ছে ঈদের প্রস্তুতি।

এদিকে স্বনামধন্য প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শেকড় মাল্টিমিডিয়াও সীমিত আকাড়ে করেছে ঈদের আয়োজন। আসছে ঈদ উপলক্ষে শেকড় মাল্টিমিডিয়া উপহার দিতে যাচ্ছে চারটি ঈদের নাটক। নাটকগুলোর নাম "ঠেলার নাম বাবাজি", " বাসা ভাড়া ", "প থেকে প্রেম" এবং "রোমান্টিক সিন"।

ঠেলার নাম বাবাজি-
শেকড় মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত বাংলা সুপার কমেডি নাটক "ঠেলার নাম বাবাজি"। ফারুক আহমেদ রানা'র রচনায় নাটকটির চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন মনির আহমেদ খান। এই নাটকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন তামিম খন্দকার, জেরীন তাসনীম অন্তরা, হুসাইন সাইদি, আনোয়ার হোসেন, সাহেলা আক্তার, নাজিম উদ্দিন সহ আরও অনেকে।
জাহিদ নান্নুর চিত্রগ্রহণে নাটকটির সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন রতন রহমান।
নাটকটি ঈদ উপলক্ষে চ্যানেল নাইন এ ঈদের অনুষ্ঠান মালায় প্রচারিত হবে এবং পরে শেকড় মাল্টিমিডিয়া এর অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পাবে।

বাসা ভাড়া-
শেকড় মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত তারকাবহুল নাটক "বাসা ভাড়া"। ব্যাচেলর জীবনের দারুণ কিছু বাস্তবতা নিয়ে তৈরি হয়েছে নতুন এই নাটকটি। ফারুক আহমেদ রানা'র রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন আতিফ আসলাম বাবলু। এই নাটকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাহরিয়ার নেওয়াজ জনী, সিয়াম নাসির, আফ্রি সেলিনা, প্রান্ত ইসলাম শায়লা সুলতানা সাথী, এইচ কে স্বাধীন, হারুন রশীদ, শাহরিয়ার প্রিন্স সহ আরও অনেকে। 
প্রধান সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন রতন রহমান এবং সহকারী পরিচালক হিসেবে ছিলেন আরফিন নিলয় ও সবুজ হোসাইন ইফতি। চিত্রগ্রহণে রানা শেখ।নাটকটি ঈদ উপলক্ষে এশিয়ান টিভিতে প্রচার হবে এবং পরে শেকড় মাল্টিমিডিয়ার  অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পাবে।

প থেকে প্রেম-শেকড় মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত ঈদের নাটক "প থেকে প্রেম"। এ্যালেন টিটু'র গল্প রচনায় এবং আতিফ আসলাম বাবলু'র পরিচালনায় একদম নিখাঁদ ভালোবাসার গল্প নিয়ে তৈরি এই নাটকে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুমিত সেনগুপ্ত ও খাতিজা আক্তার।
চিত্রগ্রহনে সাইফুল ইসলাম। নাটকটি শেকড় মাল্টিমিডিয়া এর অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পাবে।

রোমান্টিক সিন-
ঈদের নাটক "রোমেন্টিক সিন"। আবুল হোসেন মাহমুদ এর গল্প রচনা, চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় দারুণ এই নাটকটিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন তামিম খন্দকার, শ্রাবন্তী সেলিনা, সাইদি,  আহ্লাদী, রাফি ওয়াটসন, রায়হান রাফসান নাফি, সগীর খাঁন, মিরাজ, শুভ, সাদ্দাম, এবং আরও অনেকে। 
রাজন রম এর চিত্রধারণে সহকারী পরিচালনা করেছেন রাফি খান দিদার ও যুবায়ের জোয়ার্দার। ম্যাকওভার রিপন মিয়া।নাটকটি শেকড় মাল্টিমিডিয়া এর অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পাবে।

এ প্রসঙ্গে শেকড় মাল্টিমিডিয়া এর কর্নধার মনির আহমেদ খান জানালেন, ইচ্ছে ছিলো অনেকগুলো কাজ এবারের ঈদে উপহার দিবো। কিন্তু করোনাভাইরাস এর অতি বিস্তার এবং লকডাউন এর কারণে তা আর সম্ভব হলো না। তারপরও থেমে থাকিনি। চেষ্টা করেছি ভালো কিছু কাজ উপহার দিতে। আমাদের শেকড় মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত যে নাটকগুলো এই ঈদ উপলক্ষে আসছে সেগুলো সত্যিই দর্শক-শ্রোতাদের মন জয় করে নিবে ইনশাআল্লাহ। নাটকগুলো দেখার আমন্ত্রণ রইলো। সবাইকে অগ্রীম ঈদের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। সবাই সুস্থ ও নিরাপদ থাকবেন এটাই প্রত্যাশা।

লালমনিরহাটে প্রধান মন্ত্রীর উপহার বিতরণ

লালমনিরহাটে প্রধান মন্ত্রীর উপহার বিতরণ

রশিদুল ইসলাম রিপন, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রমিকদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বিশেষ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল সকাল থেকে শুরু করে বিকেল ৪টা পর্যন্ত লালমনিরহাট শেখ কামাল স্টেডিয়াম মাঠে ৭০০জন কর্মহীন ও দরিদ্র শ্রমিকের মাঝে এ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। উপহারে প্রত্যেক শ্রমিককে ১০কেজি চাল, ৩ কেজি আলু,১ কেজি মসুর ডাল,১ লিটার সয়াবিন তেল,১ কেজি লবণ বিতরণ করা হয়। খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, লালমনিরহাটের জেলা প্রশাসক আবু জাফর , অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক টিএম রাহসিন কবীর, মোঃ রফিকুল হক প্রধান এডিসি জেনারেল, টি এম এ মমিন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, অ্যাড সফুরা বেগম রুমি সদস্য কার্যনির্বাহী কমিটি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, লালমনিরহাট পৌরসভার মেয়োর রেজাউল করিম স্বপন, অ্যাড বাদল আশরাফ সহ-সভাপতি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লালমনিরহাট জেলা শাখা, মোঃ কামরুজ্জামান সুজন চেয়ারম্যান সদর উপজেলা পরিষদ প্রমুখ। করোনা-১৯ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে লালমনিরহাট সদর উপজেলার বাস মিনিবাস ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্ত কর্মহীন দরিদ্র শ্রমিকদের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উপহার শ্রমিকদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।

এ সময় লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর বলেন, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত কর্মহীন দরিদ্র শ্রমিক ও সাধারণ মানুষের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উপহার চলমান থাকবে এবং লালমনিরহাট জেলার কর্মহীন সাধারণ মানুষ ও শ্রমিক কেউ না খেয়ে থাকবে না এই বলে তাদেরকে আশ্বস্ত করেন ও মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর জন্য সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন

দুর্ঘটনার কবলে মেহেরপুর প্রাণিসম্পদ অফিসের পিকআপ!

দুর্ঘটনার কবলে মেহেরপুর প্রাণিসম্পদ অফিসের পিকআপ!
দুর্ঘটনার কবলে মেহেরপুর প্রাণিসম্পদ অফিসের পিকআপ!
তানভীর আহমেদ, মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধিঃ দুর্ঘটনার কবলে পড়ে মেহেরপুর জেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের পিকআপ ভ্যানটি (যার নম্বর- ঢাকা মেট্রো-ঠ ১১-২৬৫৫) দুমড়ে মুচড়ে গেছে। 
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে গাংনীর ছাতিয়ান নামক স্থানে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক যার নং-(ঢাকা মেট্রো-ড-১৪-৪২৫৮) তাকে ধাক্কা দিলে এটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। এসময় গাড়ি চালক সাজাহান আলী আহত হন। স্থানীয় জনতা ধাক্কা দেয়া ট্রাকটিকে আটক করেছে।

কি কারণে সরকারী গাড়িটি ছাতিয়ান নামক স্থানে গেল এবং কেন এ দুর্ঘটনা তা নিয়ে একেক কর্মকর্তা একেক ধরণের বর্ণনা দিয়েছেন। প্রকৃত ঘটনাটি ধামা চাপা দিতে তাদের এই বক্তব্য আলোচনায় এসেছে।

আহত চালক সাজাহান আলী জানান, জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সাইদুর রহমান জরুরী প্রয়োজনে নিজ বাড়ি রংপুরে যাচ্ছিলেন। তাকে কুষ্টিয়াতে রেখে মেহেরপুরে ফেরার পথে বিপরীত দিক থেকে আসা ট্রাকটি গাড়ির ডান দিকে ধাক্কা দিলে এটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। একই কথা জানিয়েছেন জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সাইদুর রহমান। 

অথচ জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের প্রধান সহকারি মিলন জানান, গাংনীর মহাম্মদপুর বাজারে ভ্রাম্যমাণ ডিম দুধ বিক্রি ক্যাম্প চলছিল। সে ক্যাম্প পরিদর্শন করেন স্যার। পরে সেখানে থেকে ফেরার পথে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে পিকআপ ভ্যানটি।
চালক, প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আর প্রধান সহকারীর বক্তব্যে গড়মিল হওয়ায় জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। 

একটি সুত্র জানা যায়,  সরকারী গাড়ি কোন কাজে নিয়ে যেতে হলে তার লগবুক সাথে নিয়ে মুভমেন্ট অর্ডার লিখতে হয়। জেলার বাইরে যেতে হলে জেলা প্রশাসন কর্তৃক অনুমতি গ্রহণ সাপেক্ষে অন পেমেন্টে নিয়ে যেতে হয়। প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা কীভাবে গাড়িটি নিয়ে গেলেন? এর জবাব প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা দেননি।
এদিকে অফিসের নানা জবাব দিহীতার মধ্যে পড়তে হবে ভেবে তিনি ভিন্ন বক্তব্য পেশ করেছেন। গাড়ির মেইন্টেনেন্সসহ যাবতীয় কাজ প্রধান সহকারীকে করতে হয়। গাড়ির গন্তব্য ও দুর্ঘটনার কারণে তাকেই জবাবদিহি করতে হবে বিধায় প্রধান সহকারী ঘটনাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করছেন বলে মন্তব্য করেছেন অনেকেই।

আশাশুনির সাবেক এমপি আলী আহমেদের মৃত্যুতে শোক

আশাশুনির সাবেক এমপি আলী আহমেদের মৃত্যুতে শোক

আহসান  উল্লাহ  বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আঞ্চলিক সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি, খুলনা আহ্ছানিয়া মিশনের সভাপতি, খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, দৈনিক অনির্বাণ পত্রিকার সম্পাদক, সাতক্ষীরা-৩ আশাশুনির সাবেক এমপি, সাতক্ষীরার কৃতি সন্তান অধ্যক্ষ আলী আহমেদ ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি অইন্না ইরায়হি রাজেউন)। 

অধ্যক্ষ আলী আহমেদ হাট ও কিডনির রোগে ভুগছিলেন। মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বিএনপি'র নির্বাহী সদস্য ও আশাশুনি আসনে এমপি প্রার্থী ডাঃ শহিদুল আলম,উপজেলা বিএনপি'র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হেদায়েতুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রুহুল কুদ্দুছ, সহ-সভাপতি আবু হেনা মোস্তফা কামাল, এড. গোলাম গনি দুদু, সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল আহসান, জুলফিকর আলি জুলি, মহিলা সম্পাদক সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহানারা খাতুনসহ উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসহযোগি সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দ।

লোহাগড়াতে নবগঙ্গা পিওর ড্রিংকিং ওয়াটারের নামে মানুষের সাথে প্রতারণা

লোহাগড়াতে নবগঙ্গা পিওর ড্রিংকিং ওয়াটারের নামে মানুষের সাথে প্রতারণা

মো:আজিজুর বিশ্বাস,স্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃনড়াইল জেলার লোহাগড়া পৌরসভা এলাকার মশাঘুনী গ্রামে সরকারি অনুমোদন ছাড়াই  নবগঙ্গা পিওর ড্রিংকিং ওয়াটারের কারখানায়  অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে বোতলে করে পানি বিক্রি করে মানুষকে ঠকানো হচ্ছে বলে দেখা যায়।

২৯ শে এপ্রিল ২০২১বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নিরিবিলি পিকনিক কর্নারের মেইন গেটের দক্ষিণ পাশে ফাঁকা জায়গাতে একটা ফ্লাট বাড়ি করে সেখানে কিছু মেশিন লাগিয়ে বানানো হয়েছে নবগঙ্গা পিওর ড্রিংকিং ওয়াটার কারখানা, এই ফ্লাটের এক পাশে রয়েছে ফ্যামিলি বাসা, ও অপর পাশে এই পানির কারখানা, কারখানার ভিতরে রয়েছে কর্মচারীদের এটাস্ট বাথরুম, ওই বাথরুমের ভিতরে গিয়ে দেখা যায়,অনুমান১০০শত পানির বোতল, এবং একজন কর্মচারী কে প্রেশাব করতে বাথরুমে।




 এ সময় সেখানে সাংবাদিকদের দেখে হাজির হয় কারখানার মালিক শেখ শাহ্ আলম,এর ছেলে,শেখ তৈমুর রহমান, তখন তৈমুর এর সাথে কারখানার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা নতুন কারখানা করেছি এবং কর্মচারীদের জন্য বাথরুম বানানো হয়েছে, এসময় ওই কারখানা তৈরীর সরকারি অনুমোদনের বিষয়ে কথা হলে তৈমুর রহমান বলেন সরকারি সব কাগজ আছে,তখন কাগজ চাইলে বলেন কাগজ তার পিতা: শেখ শাহ্ আলমের কাছে আছেন, এবং তাদের কারখানায়   তৈরি এই পানি ১০০% পিওর বলে দাবি করেন। এবং বাথরুমের ভিতরে থাকা বোতলের কথা বলেন ওটা পরিস্কারের জন্য ওখানে রাখা হয়েছে। 


এরপরে মুঠোফোনে শেখ শাহ্ আলম এর সাথে কথা হলে প্রথমে তিনি সাংবাদিকদের বলেন,সরকারি সব কাগজ আছে,সেটা দেখানোর জন্য বলা হলে পরে শেখ শাহ্ আলম বলেন  কাগজপত্রের প্রসেসিং এর কাজ চলতেছে, তখন তিনি আরে জানায় তিনি নিজে  সাংবাদিক,এই বলে পরিচয় দিতে থাকে ও বলেন, আপনার সাথে সাক্ষাতে কথা হবে,এত কিছু জিজ্ঞেস করার দরকার নাই।
এ সময় শেখ শাহ্ আলমের কথাতে বুঝাই যে সরকারি কোনো অনুমতি ছাড়াই অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে  তৈরি করা হচ্ছে নবগঙ্গা পিওর  ড্রিংকিং ওয়াটার। 


এ সময় কয়েকজন নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক পথচারীদের সাথে কথা হলে তারা বলেন, অনেক দিন যাবত দেখেছি,দিঘলিয়ার কুমড়ি গ্রাম থেকে এসে তারা এই ফাঁকা যাইগায় বাড়ি করে এই পানির কারখানা করেছেন ও ব্যবসা করছেন।তখন তারা আরো বলেন, এখানে যে ভাবে পানি বোতলে ভরা হয় তাতে মনে হয় না স্বাস্থ্যকর পরিবেশেই কারখানা হয়েছে।

 তখন পথচারী নান্নু শেখ নামে এক যুবকের সাথে কথা হলে তিনি জানান, এটা প্রশাসনের নজরে আনা উচিৎ, টাকা দিয়ে মানুষ কেনো এই পানি কিনে খাবে বলে জানান। 

চিরিরবন্দরে কিন্ডারগার্টেন স্কুল শিক্ষকদের মানবেতর জীবন

চিরিরবন্দরে কিন্ডারগার্টেন স্কুল শিক্ষকদের মানবেতর জীবন

মো. মিজানুর রহমান মিজান, চিরিরবন্দর দিনাজপুর,  প্রতিনিধিঃ করোনার কারণে সারা দেশের ন্যায় প্রায় ১৩ মাস ধরে সরকারী বেসরকারি স্কুল, আলিয়া মাদরাসা ও কলেজ বন্ধ রয়েছে। ক্বওমী মাদরাসা বেশ কয়েক মাস বন্ধ থাকার পর খুলে দিলেও সম্প্রতি লকডাউন ও করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে আবারো বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। অনলাইনে টুকটাক ক্লাস হলেও অধিকাংশ শিক্ষার্থীই এই সুবিধা থেকে বঞ্চিত। এই দু:সময়ে সরকারী বা আধা সরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা নিয়মিত বেতনাদি পেলেও কিন্ডারগার্টেন স্কুল ও বেসরকারী নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা প্রাইভেট কোচিংসহ সব ধরনের সুবিধাবঞ্চিত হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। 
তারা সমাজের বিশেষ সম্মানীয় ব্যক্তি হওয়ায় ও মূলধনের অভাবে অন্য কোন পেশাও বেছে নিতে না পারায় বেকায়দায় রয়েছেন বলে জানিয়েছেন। কেউ কেউ ঘরভাড়া, বিদ্যুৎবিল ও স্টাফদের বেতনাদি না দিতে পেরে স্কুল বন্ধ করে দিয়েছেন। 
এ ব্যাপারে কিন্ডারগার্টেন অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নন্দন কুমার দাস বলেন, চিরিরবন্দর উপজেলার প্রায় ৮৫টি কিন্ডারগার্টেন স্কুলের মধ্যে অন্তত ১০টি কিন্ডারগার্টেন স্কুল ইতোমধ্যে একেবারে বন্ধ হয়ে গেছে। আরো কিছু বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে।  এসব স্কুলের প্রায় ৬ শতাধিক শিক্ষক শিক্ষিকা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। চিরিরবন্দর উপজেলার হোমল্যান্ড রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল ও কিন্ডারগার্টেন স্কুলের পরিচালক মোঃ গোলাম রব্বানী বলেন, বেসরকারী বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষকরা দীর্ঘ সময় ধরে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছেন। অথচ এসব স্কুলের প্রতি সরকারের কোন দয়াদৃষ্টি না থাকায় আমরা নানাবিধ সমস্যায় রয়েছি। 
আমেনা বাকি রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুলের সঙ্গীত (তবলা) শিক্ষক আরব আলী বকুল বলেন, কেউ কেউ ঘরে বসে বসে ধার কর্জ করতে করতে ঋণের বোঝা ভারি হওয়ায় পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ও মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের লক্ষ্যে উপজেলা কিন্ডারগার্টেন ও বেসরকারি স্কুল অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনাকালীন আমাদের ঘরভাড়া মওকুফসহ এসব স্কুলের নামে সহজ শর্তে কিছু ঋণের ব্যবস্থা করলে ভাল হতো। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে আমরা সরকারের নিকট জোরালো দাবি জানাচ্ছি।

চিরিরবন্দরে দেড়শত বছরের রাস্তা কাঁটা দিয়ে বন্ধ

চিরিরবন্দরে দেড়শত বছরের রাস্তা কাঁটা দিয়ে বন্ধ
দেড়শত বছরের রাস্তা কাটা দিয়ে বন্ধ
মো. মিজানুর রহমান মিজান, চিরিরবন্দর, (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ চিরিরবন্দরে দেড়শত বছরের পুরাতন চলাচলের রাস্তাটি বেহাল দশা হওয়া ছাড়াও পুকুর মালিক কতৃক বরই কাঁটা দিয়ে বন্ধ করে দেয়ায় মসজিদেও যেতে পারছেনা মুসল্লীগণ। এ নিয়ে অত্রালাকায় মুসল্লীদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট দেয়া অভিযোগের সূত্র ধরে গত বুধবার বিকেলে সরজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, পুকুর মালিক আইনুদ্দিন প্রামাণিক মুসল্লীদের চলাচলের রাস্তায় কাঁটা দিয়ে বন্ধ ও সংস্কার করতে না দেয়ায় মুসল্লীসহ জনসাধারণের চলাচলের অনুপযোগী  করে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও পার্শ্ববর্তি বাড়ির দেয়ালের ভিত্তির মাটি সরে যাওয়ায় যে কোন মুহুর্তে ওই বাড়িটি পুকুরে বিলীন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পুকুর মালিক আইনুদ্দিন প্রামাণিক জানান, দেড়শত বছরের অধিক ওই রাস্তাটি তার বাবার জমির উপর দিয়ে হয়েছে। এটি কোন রেকর্ডিয় রাস্তা নয়। তাছাড়া পুকুরের পার্শ্ববর্তি বাড়ির সব পানি পুকুরে পড়ে ও বর্ষাকালের পানি দিয়ে পুকুর ভরাট হয়ে যায়। ফলে রাস্তাটি ডুবে গিয়ে ভেঙ্গে যায়। এরপর আর সংস্কার করতে দেয়া হয়নি। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে প্রতিবেশিরা পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ মেরে ফেলে। এ কারণে বর্তমানে রাস্তাটি কাঁটা দিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। 
প্রতিবেশি মুসল্লী আফজাল হোসেন, আবু বকর ছিদ্দিকসহ অনেকে জানান, দেড়শত বছরেরও অধিক পুরাতন ওই রাস্তাটি দিয়ে আমরা পাড়ার সকল লোকজন চলাচল করতাম। মসজিদে নামাজপড়া সহ সব ধরনের চলাচল ওই রাস্তা দিয়ে করা হত। বছর খানেক আগে বর্ষার পানি দিয়ে পুকুর ভরাট হলে ওই রাস্তাটিও ডুবে যায়, গাইড ওয়ালটি ভেঙ্গে গিয়ে চলাচলের অনুপযোগি হয়ে পড়ে। এরপর থেকে সংস্কারও করতে দেয়া হয়নি। তারপরও সকলে কষ্ট করে চলাচল করলেও বর্তমানে বরই কাঁটা দিয়ে রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এতে করে আমরা চরম অসুবিধায় পড়েছি। অনেক দূর দিয়ে বিকল্প রাস্তা দিয়ে মসজিদে যাতায়াত করছি।
আব্দুলপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ওই পাড়ার বাসিন্দা মোঃ মোখলেছুর রহমান জানান, দেড়শত বছরের অধিক সময় ধরে চালু থাকা রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়ায় পাড়ার লোকজন মসজিদেও যেতে পারছেনা। এতে করে তাদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তাছাড়া বর্ষাকালে পুকুরের পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা থাকলেও পুকুর মালিক সেটি বন্ধ করে রাখায় পুকুর ভরাট হয়ে প্রচন্ড রকমের জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এটি সমাধান হওয়া প্রয়োজন।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মোঃ ময়েন উদ্দিন শাহ এ ব্যাপারে বলেন, বিগত ১৩/১৪ বছর পূর্বে ওই রাস্তাটি যাতে পুকুরে ভেঙ্গে না পড়ে, সেজন্য গাইড ওয়াল করে দেয়া হয়েছিল। গত বর্ষায় গাইড ওয়ালটি ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে ভেঙ্গে পড়ে। গাইড ওয়ালটি সংস্কার করে পুনরায় চলাচলের উপযোগী করা সম্ভব। চিরিরবন্দর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোরশেদ উল আলমের মধ্যস্থতায় ঈদ-উল ফিতর পর্যন্ত সময় দিয়ে কাঁটা সরানো হয়েছে বলে জানা গেছে।
উপজেলা প্রকৌশলী মুহাঃ ফারুক হাসান বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আলোচনার ভিত্তিতে পুনরায় ওই রাস্তাটি চালু করতে সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হবে।
অপরদিকে এলাকাবাসী জরুরী ভিত্তিতে ওই রাস্তাটি চলাচলের উপযোগী করতে প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে জে জে এস এর ৭দিন ব্যাপি বিভিন্ন কর্মসূচি পালন

জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে জে জে এস এর ৭দিন ব্যাপি বিভিন্ন কর্মসূচি পালন

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা ঃ জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে জে জে এস এর বিভিন্ন কর্মসূচি পালন।২৩ তাং শুরু হয় কর্মসূচি শেষ হয় আজ ২৯ তাং।৭দিন ব্যাপি চলে তাদের এই কর্মসূচী।কর্মসূচীর প্রথম দিন ২৩ তাং জুমার নামাজের সময় স্হানীয় ১৫ টি মসজিদে পুষ্টি বিষয়ক আলোচনা করা হয় ,এছাড়া ৮০০ জনকে  লিফলেট, মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করা। ২৪ এপ্রিল দিনব্যাপী ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প আয়োজনের মাধ্যমে গর্ভবতী, ৫ বছরের কম বয়সী শিশু, কিশোরীদের পুষ্টি বিষয়ক কাউন্সেলিং করা, হাতধোয়া সহ সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক  করোনা মোকাবিলায় নানা রকম স্বাস্থ্য বিধি মানা, অঘঈ চেকআপ, গটঅঈ পরিমাপ, এগচ কার্ড পূরণ, মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করা। ২৫ এপ্রিল, দিনব্যাপী ফি মেডিকেল ক্যাম্প আয়োজনের মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধা ও বয়স্কদের পুষ্টি বিষয়ক কাউন্সেলিং করা, স্বাস্থ্যসেবা প্রদান, ব্লাড প্রেসার এবং ব্লাড সুগার পরিমাপ করা, লিফলেট বিতরন করা এবং হাইজিন প্যাকেজ বিতরন  করা হয় ।মোট ৪৫ জনকে সেবা প্রদান করা হয়। ২৬ এপ্রিল,স্থানীয় ১৩ টি কমিউনিটি ক্লিনিকে কিশোরী, ৫ বছরের কম বয়সী শিশুর মা, বয়স্ক ব্যক্তি ও গর্ভবতী সহ ২৫০জনকে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে পুষ্টি বিষয়ক কাউন্সেলিং প্রদান করা সহ কমিউনিটি ক্লিনিকের সেবাসমূহের বিস্তারিত ধারনা প্রদান করা হয়। ২৭ এপ্রিল এতিমখানা ও লিল্লাহ বোর্ডিং এ বসবাসরত সুবিধাবঞ্চিত শিশুদেও মাঝে ১০০টি ফুড প্যাকেজ বিতরণ করা  হয়। ১ টি প্যাকেজ=(চাল-১০ কেজী, তেল-১ লিটার, মসুর ডাল-১ কেজী , পিঁয়াজ-১ কেজী, লবন-১ কেজী, আলু-৩ কেজী, সুজি-৫০০ গ্রাম, চিনি-৫০০ গ্রাম, খেঁজুর-৫০০ গ্রাম)।২৮ এপ্রিল স্থানীয় সরকারের আশ্রায়ন প্রকল্পে বসবাসরত সুবিধাবঞ্চিত ৮০ টি পরিবারের মাঝে ফুড প্যাকেজ বিতরণ করা। ১ টি প্যাকেজ=(চাল-১০ কেজী, তেল-১ লিটার, মসুর ডাল-১ কেজী , পিঁয়াজ-১ কেজী, লবন-১ কেজী, আলু-৩ কেজী, সুজি-৫০০ গ্রাম, চিনি-৫০০ গ্রাম, খেঁজুর-৫০০ গ্রাম)।  ২৯ এপ্রিল উপজেলা পরিষদে উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির সভার মাধ্যমে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ ২০২১ এর সমাপনী ও দ্বি-মাসিক সভা হয়।

সাতক্ষীরা-৩ আসনের সাবেক সংসদ খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ আলী আহমেদ’র মৃত্যু

সাতক্ষীরা-৩ আসনের সাবেক সংসদ খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ আলী আহমেদ’র মৃত্যু

আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা -৩ আসনের সাবেক সংসদ খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, বাংলাদেশ আঞ্চলিক সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি ও দৈনিক অনির্বাণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আলী আহমেদ (৮০)'র মৃত্যু। বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে খুলনার  নার্গিস মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি …. রাজিউন)। 

দৈনিক অনির্বাণের ব্যবস্থাপক মোঃ আবুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

মরহুম আলী আহমেদের জানাজা বৃহস্পতিবার তারাবির নামাজের পর খুলনা মহানগরীর সার ইকবাল রোডের মতি মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে মরহুমকে টুটপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হবে। মরহুম আলী আহমেদ সাতক্ষীরা-৩ (আশাশুনি) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও খুলনার মজিদ মেমোরিয়াল সিটি কলেজের অধ্যক্ষ ও আহছান উল্লাহ কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন।

শার্শায় সরকারী ভাবে ধান সংগ্রহের উদ্বোধন

শার্শায় সরকারী ভাবে ধান সংগ্রহের উদ্বোধন


তুহিন হোসেন, বেনাপোল প্রতিনিধি  : যশোরের শার্শা উপজেলায় সরকারী ভাবে বোরো মৌসুমে ধান সংগ্রহ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার নাভারন বাজারে খাদ্য গুদামে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু।

সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে উপেজলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা'র সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মামুন হোসেন খান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা লালটু মিয়া, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সৌতম কুমার শীল, নাভারন খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আক্তারুজ্জামান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব সালেহ আহমেদ মিন্টু, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন,  সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মুরাদ হোসেন ও শার্শা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইয়ানুর রহমান প্রমুখ। 
শার্শা উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা মামুন হোসেন খান বলেন, চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় ২৮শ' ৮৯ মেট্রিকটন ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এবার কৃষি অফিসের তালিকাভুক্ত কৃষকের নিকট থেকে সর্বনিম্ন ১ টন এবং সর্বোচ্চ ৩ টন করে ২৭ টাকা কেজি মূল্যে ধান সংগ্রহ করা হবে বলে জানান নাভারন খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আক্তারুজ্জামান।

আশাশুনিতে বাগদা চিংড়িতে অপদ্রব্য পুশ করার অপরাধে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা

আশাশুনিতে বাগদা চিংড়িতে অপদ্রব্য পুশ করার অপরাধে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধি: আশাশুনিতে বাগদা চিংড়িতে অপদ্রব্য পুশ করার অপরাধে এক ব্যবসায়ীকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানাসহ ৪০ কেজি মাছ বিনষ্ট করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় সাতক্ষীরার ডিবি ও আশাশুনি থানা পুলিশের অভিযানে উপজেলার শোভনালী ইউনিয়নের বালিয়াপুর গ্রামের মৃত কার্তিক চন্দ্র সরকারের ছেলে সাধন সরকারের বাড়িতে বাগদা চিংড়িতে অপদ্রব্য পুশ করা হাতেনাতে আটক করেন। সঙ্গে সঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করলে তিনি উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও
এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শাহীন সুলতানাকে পাঠান। সেখানে তিনি ভ্রাম‍্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ১৫ হাজার টাকা জরিমানাসহ ৪০ কেজি মাছ বিনষ্ট করেন। এসময় উপজেলা সিনিয়র মৎস্য অফিসার সৈকত মল্লিক, সহকারী মৎস্য অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান, আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবিরের নেতৃত্বে এসআই শফিউল্লাহ, সাতক্ষীরা ডিবি পুলিশের এসআই মনির হোসেন ও অফিস সহকারি মোস্তাফিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশের সহায়তায় প্রতারিত টাকা ফেরত পেল নাছিমা

পুলিশের সহায়তায় প্রতারিত টাকা ফেরত পেল নাছিমা

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ  নাছিমা আক্তার (৪১),(অন্ধ মহিলা) স্বামী-মীর আশরাফ হোসেন, সাং-হাসনহাটি, থানা-নগরকান্দা, জেলা-ফরিদপুর এর বিকাশ একাউন্ট থেকে ৩০,৪০০/-টাকা বিকাশ প্রতারকরা নিয়ে যায়। উক্ত মহিলা নগরকান্দা থানায় এসে অবহিত  করলে  নগরকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ  সেলিম রেজা  প্রযুক্তি ব্যবহার করে  নাছিমা আক্তার এর ৩০,৪০০/-টাকা উদ্ধার পূর্বক তার  বাড়ীতে গিয়ে তার নিকট পৌছে দেন। এ সময় নগরকান্দা থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত  জিয়ারুল ইসলাম, এসআই আব্দুল্লাহ আজিজ সহ স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

ঝালকাঠি জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আল আমিনের উদ্দ্যোগে খাদ্য সহায়তা

ঝালকাঠি জেলা ছাত্রলীগের  সাধারণ সম্পাদক এস এম আল আমিনের উদ্দ্যোগে  খাদ্য সহায়তা

এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফ।
স্টাফ রিপোর্টারঃ বৈশ্বিক মহামারি কোভিড ১৯ যখন সারা বিশ্বকে হতবাক করে দিয়েছে লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পরেছে হাজার হাজার পরিবার,ঠিক তখন সরকারের পাশাপাশি এগিয়ে এসেছে বিভিন্ন মানবিক সংগঠন ও মানবিক যোদ্বারা।

ঝালকাঠি জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আল আমিন তেমনি একজন মানবিক যোদ্বা। প্রথম থেকেই করোনায় কর্মহীন মানুষের পাশে  কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

চলমান লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়া সাধারণ জনগনের মাঝে রাতের অন্দ্বকারে বিলিয়ে বেড়াচ্ছে খাদ্য দ্রব্য ভর্তি প্যাকেট,প্রথম পর্বে ৩৬০টি পরিবার এবং চলমান পর্বে ৭০০পরিবারের মধ্যে ৫কেজি চাল,২কেজি আলু,১কেজি ডাল সহ ৭টি পন্য, আজ থেকে অসহায় মানুষের ঘরে ঘরে পৌছে দিচ্ছেন তরুন উদিয়মান ছাত্রনেতা।

এব্যাপারে ফজলে এলাহী মিজান বলেন,বর্তমান সময়ে চলমান লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পরেছে হাজার হাজার মানুষ আমাদের এলাকা এর ব্যাতিক্রম নয়,আল আমিন আমাদের এলাকার অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়েছে,সে আমাদের এলাকার গর্ব,এভাবেই সকল বিত্তবান মানুষেরা এগিয়ে আসলে সমাজ এগিয়ে যেত মানবিক ভালবাসায়।

এস এম আল আমিন বলেন পিতা মুজিব সারা জিবন অসহায় মানুষের জন্য লড়াই সংগ্রাম করে গেছেন,তার আদর্শে বলিয়ান হয়ে ছোট বেলা থেকেই ছাত্র রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলাম।

বর্তমান পরিস্থিতি খুবই ভয়ংকর, লকডাউনে মানুষ অসহায়, আমার রাজনৈতিক অভিবাবক, বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রবাদ পুরুষ,জননেতা আলহাজ্ব আমির হোসেন আমু  ভাইয়ের নির্দেশক্রমে আমি আমার যায়গা থেকে আমার স্বাধ্যমত এলাকার জনসাধারণের পাশে থাকার চেস্টা করে যাচ্ছি।সকলের দোয়া ও ভালবাসা নিয়ে আমি সারা জীবন তাদের পাশে থাকতে চাই।

ধানের সরকারি মুল্য ১৫শ টাকা মণ করার দাবিতে কৃষক ফ্রন্টের মানববন্ধন ও সমাবেশ!

ধানের সরকারি মুল্য ১৫শ টাকা মণ করার দাবিতে  কৃষক ফ্রন্টের মানববন্ধন ও সমাবেশ!

মোঃআরিফুল ইসলাম অনিক জয়পুরহাট (পাঁচবিবি) উপজেলা প্রতিনিধিঃ কৃষক বাঁচাতে ইরি ধানের দাম ১৫০০ টাকা নির্ধারণ করে মূল্য সহায়তা দিয়ে প্রতি ইউনিয়নে ক্রয় কেন্দ্র খুলে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে  ধান ক্রয় করার দাবিতে জয়পুরহাট জেলা ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের মানব বন্ধন ও সমাবেশ হয়েছে।
অদ্য ২৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সকাল ১০.৩০ মিনিটে জয়পুরহাট জেলার পাঁচুরমোড়ে সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর ও সাধারন কৃষক ফ্রন্ট,জয়পুরহাট জেলা শাখার উদ্যোগে  ঘন্টাব্যাপী সভমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। 

জেলা ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক সামিউল ইসলাম বাবু'র সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন,  ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জয়পুরহাট জেলা বাসদ আহ্বায়ক  কমরেড অধ্যক্ষ ওয়াজেদ পারভেজ, জেলা ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের সদস্য, সুন্দরী উরাও জেলা ছাত্র ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রাশেদ সহ আরো অনেকে।


বক্তারা বলেন, সরকার বোরো ধানের লাভজনক দাম নির্ধারণ না করে চাতাল ও মিল মালিকদের স্বার্থ রক্ষায় ধান চালের ক্রয় মূল্য ও পরিমাণ নির্ধারণ করছে। এ বছর সরকারের খাদ্য গুদামে গত ১৩ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন ৩ লাখ মেট্রিক টন মজুদ থাকায় ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের চক্রান্তে চালের দাম কয়েক দফা বাড়িয়ে বাজারে অস্থিরতা তৈরি করা হয়েছে। 


জনগণের দুর্ভোগ বেড়েছে। চালের বাজার স্থিতিশীল রাখতে সরকারি মজুদ বাড়ানো দরকার যাতে সিন্ডিকেট বাজার অস্থিতিশীল করতে চাইলে সরকার খোলা বাজারে চাল বিক্রি বাড়িয়ে এবং সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিতে খাদ্য শস্য সরবরাহ করে দাম স্থিতিশীল রাখতে হবে।


কৃষক নেতা ওয়াজেদ পারভেজ বলেন,ধান ক্রয়ের কথা বললে সরকার বলে তাদের ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন গোডাউন নাই। অথচ ২ বছর আগে সরকার ৫ হাজার টন ধারণ ক্ষমতার ২০০টি খাদ্য গোডাউন নির্মাণের ঘোষণা দিলেও এখনও পর্যন্ত তা নির্মাণ করা হয়নি। 


আমরা দাবি করছি দ্রুত পর্যাপ্ত পরিমাণে গোডাউন নির্মাণ করে ধারণ ক্ষমতা বাড়াতে। যতক্ষণ তা সম্পন্ন না হয় ততক্ষণ বেসরকারি গোডাউন ভাড়া করে এবং প্রয়োজনে কৃষকের বাড়ীতেই ধান কিনে রাখার দাবি জানাচ্ছি।

ঘন্টাব্যাপি মানববন্ধন ও সমাবেশ থেকে কৃষকের ন্যায্য দাবি গুলো সরকার বিবেচনা করবে বলে নেতাকর্মীরা আশা ব্যক্ত করেন।

হিলিতে মসজিদের ক্যাশিয়ারের উপর এ্যাসিড নিক্ষেপকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

হিলিতে মসজিদের ক্যাশিয়ারের উপর এ্যাসিড নিক্ষেপকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

কৌশিক চৌধুরী,  হিলি প্রতিনিধিঃদিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার রাউতাড়া গ্রামের হাজী জামে মসজিদের ক্যাশিয়ার ইলিয়াস মন্ডলের উপর এ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে এলাকার সাধারণ গ্রামবাসী।

আজ বেলা ১২টার দিকে হিলি-ঘোড়াঘাট সড়কের রাউতাড়া নামক স্থানে গ্রামবাসীর আয়োজনে ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানবন্ধনে গ্রামের বিপুল সংখ্যক নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোরসহ সর্বস্তরের লোকজন অংশগ্রহন করেন। হাতে-হাত দিয়ে রাস্তার দু'পাশে তাড়া দাঁড়িয়ে এসিড নিক্ষেপ কারীদের গ্রেফতারের দাবি জানান। এর আগে গ্রামবাসিদের পক্ষ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

মানববন্ধন থেকে গ্রামবাসিরা অভিযোগ করেন, মসজিদের কমিটিকে কেন্দ্র করে ছোট্ট একটি ঘটনায় মসজিদের ক্যাশিয়ার ইলিয়াস মন্ডলের উপর এ্যাসিড নিক্ষেপের মতো জঘন্যতম ঘটনা ঘটানো হয়েছে। আমরা গ্রামবাসী এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। সেই সাথে তার উপর এ্যাসিড নিক্ষেপকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

এদিকে হাকিমপুর থানা অফিসার ইন-চার্জ ফেরদৌস ওয়াহিদ জানিয়েছেন, গতকাল এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষ আসামিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

কুলাউড়ায় রাষ্ট্রিয় সম্পদ কয়লার নিউজ সংগ্রহ করতে গেলে সাংবাদিক কে মামলার ও হত্যার হুমকি!

কুলাউড়ায় রাষ্ট্রিয় সম্পদ কয়লার নিউজ সংগ্রহ করতে   গেলে সাংবাদিক কে মামলার ও হত্যার হুমকি!

কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়া উপজেলার রবিরবাজারের কালা পাহাড়ের গায়ে  রাষ্ট্রিয় সম্পদ কয়লার নিউজ করতে গিয়ে সাংবাদিক কে মামলার হুমকি দেন বন বিভাগের তিন কর্মচারী, তাদের মধ্যে একজন বলেন, চামচিকা সাংবাদিক আমাদের কে শান্তি থাকতে দিন না হয় এমন মামলা দিবো ১৪ বছরে বের হতে পারবেন না।
এলাকার স্থানিয় সুত্রে জানা যায়, পাহাড়ের প্রভাবশালী একটা সিন্ডিকেট গ্রুপ ও বনবিভাগের, বিটবন কর্মকর্তা রা  উপজাতি খাসিয়া জনগোষ্ঠীর কাছ থেকে মোটা অংশের টাকা পান যা। আমরা তাদের সাক্ষাৎকার নিতে গেলে তারা আমাদের জানান যে আমরা তাদের কথা মত যেনো সাক্ষাৎকার নেই  আর তাদের কথা না শুনলে বিভিন্ন মামলার হুমকি ও বিভিন্ন রকমের হয়রানীর শিকার হতে হবে বলে জানান তারা।
এদিকে সাংবাদিকে প্রাণে মেরে ফেলার  হুমকি দিচ্ছে এলাকার প্রভাবশালী সেই মহলটি ও মামলার প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে এলাকার প্রায় মানুষের কাছে বলাবলি করতেছেন।এদিকে নিজেকে আত্মরক্ষা করতে সাংবাদিক  সেলিম আহমদ, 
 এ বিষয়টি  কুলাউড়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করতে গেলে থানার কর্মকর্তা (তদন্ত) করে দেখার আশ্বাস দেন এবং সেলিম আহমেদের কাছ থেকে সব ভিডিও ফুটেজ উনার হার্ডডিস্কে সেভ করে রেখেছেন,হয়তো এগুলা তদন্ত করে দেখা হবে।

নওগাঁ পত্নীতলা থানা পুলিশের নির্যাতনে কৃষকের মৃত্যু অভিযোগ -স্বজনদের

নওগাঁ পত্নীতলা  থানা পুলিশের নির্যাতনে কৃষকের মৃত্যু অভিযোগ -স্বজনদের

রহমতউল্লাহ,নওগাঁ  প্রতিনিধিঃ নওগাঁর পত্নীতলায় উপজেলায় পারিবারিক সমস্যা সমাধানের নামে থানায় নিয়ে এসে হামিদুর রহমান (৫০) নামে এক ব্যক্তিকে নির্যাতনের মাধ্যমে প্রথমে আহত করে পরে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে থানার ওসি সামসুল আলম শাহের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় মৃতের স্বজনরা ওসির বিচার দাবিতে লাশ নিয়ে পত্নীতলা থানা চত্বরে অবস্থান করেন। পরে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নওগাঁ মর্গে প্রেরণ করে। ময়নাতদন্ত শেষে নিহতের লাশ বুধবার বিকালে নিজ বাড়িতে দাফন করা হয়েছে।  

জানা গেছে, উপজেলার বোরাম গ্রামের মৃত খোদা বক্সের পুত্র হামিদুর রহমানের সঙ্গে তার স্ত্রী ফাহিমার পারিবারিক দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। এতে হামিদুর কয়েকদিন পূর্বে তার স্ত্রীকে তালাক দেন। এ ঘটনায় হামিদুরের ২ ছেলে তাকে মারধর করলে তিনি থানায় অভিযোগ করেন। ১৭ এপ্রিল থানায় এক সমঝোতা বৈঠকে হামিদুর তার স্ত্রীকে গ্রহণ করার প্রতিশ্রুতি প্রদান করেন।

২৫ এপ্রিল হামিদুরের স্ত্রী ফাইমা থানায় গিয়ে অভিযোগে জানান, তার স্বামী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী তাকে এখনও গ্রহণ করেননি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে একই তারিখে এসআই আশরাফুল ইসলাম সমঝোতার কথা বলে হামিদুরকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। এ সময় থানায় ফাহিমা ও হামিদুরের স্বজন ও প্রতিবেশীরা উপস্থিত ছিলেন।

সমঝোতা বৈঠকে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে ওসি সামসুল আলম শাহ ক্ষিপ্ত হয়ে হামিদুরকে উপর্যুপরি কিল-ঘুষি এবং লাথি মারতে থাকেন। একপর্যায়ে হামিদুরের মাথা ইটের ওয়ালের সঙ্গে সজোরে ধাক্কা লাগলে তিনি গুরুতর আহত হয়ে পড়েন।

একপর্যায়ে আহত হামিদুরকে থানাহাজতে বন্দি করে রাখা হলেও পরে ছেড়ে দেওয়া হয়। হামিদুরের সঙ্গে থাকা খালাতো ভাই ফারুক হোসেন ও প্রতিবেশী নইমুদ্দিন আহত অবস্থায় তাকে ডাক্তার দেখিয়ে বাড়িতে নিয়ে যান। বাড়িতেই তিনি গ্রাম্য ডাক্তারের চিকিৎসা করছিলেন।

২৭ এপ্রিল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হামিদুর রক্ত বমি শুরু করলে তাকে প্রথমে পত্নীতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ডাক্তারের পরামর্শে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত ১১টায় জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরে স্বজনরা রাতেই অ্যাম্বুলেন্স যোগে লাশ পত্নীতলা থানায় নিয়ে আসেন। বুধবার সকালে লাশের ময়নাতদন্তের পর বিকালে গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে নিহতের মা আছিয়া বলেন, আমার ছেলেকে ওসি বুকে লাথি মারায় তার মৃত্যু হয়েছে। এ সময় ছেলে হত্যার বিচার চান তিনি।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হামিদুরের খালাতো ভাই ফারুক বলেন, ওসির মারধরে দুইবার হামিদুরের মাথা ইটের দেওয়ালের সঙ্গে ধাক্কা লাগায় তিনি চরমভাবে আহত হন। ওসির মারপিটের ভয়ে হামিদুর স্ত্রীকে নিতে রাজি হলেও তার ওপর নির্যাতন চালানো হয়। ওসির মারপিটের কারণেই হামিদুরের মৃত্যু হয়েছে বলেও তিনি জানান।

তিনি আরও জানান, লাশ থানায় নিয়ে আসা হয়েছে সুষ্ঠু বিচারের জন্য। কিন্তু থানা পুলিশ মামলা নিচ্ছে না।

পত্নীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. খালিদ সাইফুল্লাহ বলেন, মঙ্গলবার রাত ৮টায় যখন হামিদুরকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় তখন তিনি রক্ত বমি করছিলেন। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। 

এ বিষয়ে পত্নীতলা থানার ওসি সামসুল আলম শাহ সমঝোতার জন্য হামিদুরকে থানায় ডেকে নিয়ে আসার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তাকে কোনো মারধর করা হয়নি। ঘটনার ৩ দিন পর অসুস্থতার কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। এরপরও ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পত্নীতলা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফতাব উদ্দীন বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। লাশের শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি। থানা পুলিশের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে প্রাথমিক অবস্থায় তার সত্যতা পাওয়া যায়নি। অন্য কোনো কারণে হামিদুর রহমানের মৃত্যু হতে পারে।