জরুরী রক্তের প্রয়োজন

জরুরী রক্তের প্রয়োজন

একজন মুমূর্ষু রোগীর জন্য    জরুরি ভিত্তিতে  B+ রক্তের প্রয়োজন। 
 স্থানঃ জান্নাত মেডিকেল মৌলভীবাজার। 

 মোবাইলঃ 01727299029

এসিআই মটরসে জনবল নিয়োগ দেয়া হবে

এসিআই মটরসে জনবল নিয়োগ দেয়া হবে

অ্যাডভান্সড কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের (এসিআই) অঙ্গ প্রতিষ্ঠান এসিআই মটরসে 'অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রোডাক্ট ম্যানেজার' পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: অ্যাডভান্সড কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড (এসিআই)

অঙ্গ প্রতিষ্ঠানের নাম: এসিআই মটরস

পদের নাম: অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রোডাক্ট ম্যানেজার
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিবিএ/বিএসসি/এমবিএ
অভিজ্ঞতা: ০৩-০৬ বছর
বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম

প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: নির্ধারিত নয়
কর্মস্থল: এসিআই সেন্টার, ঢাকা

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা https://mybdjobs.bdjobs.com/mybdjobs/signin.asp? এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সূত্র: বিডিজবস ডটকম


প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানালেন মেম্বার নোমান

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানালেন মেম্বার নোমান

গত ১৪ ফেব্রুয়ারী দৈনিক যুগান্তর, অনলাইন নিউজ পোর্টাল এইবেলা, সংবাদ মেইল, সুরমা নিউজসহ বিভিন্ন পত্র পত্রিকা ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে "কুলাউড়ায় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঘরে আগুন দিয়েছে ইউপি মেম্বার" শিরোনামে আমাকে জড়িয়ে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। মুজিববর্ষ উপলক্ষে কুলাউড়া উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নের মুকুন্দপুর গ্রামে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে দেয়া হয় ১২টি ঘর। সেই ঘরগুলো প্রশাসনের সার্বিক তত্বাবধানে জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমি নিজে উপস্থিত থেকে কাজ করি। ঘরগুলোর অবস্থান হাওরের মধ্যে হওয়ায় সেখানে বিদ্যুৎ ও পানির ব্যবস্থা না থাকায় এখনো উপকারভোগীদের মধ্যে হস্তান্তর করা হয়নি বিধায় এখানে কেউ বসবাস করছেন না। গত ১১ ফেব্রুয়ারি রাতের কোন এক সময় ১২টি ঘরের মধ্যে একটি ঘরের তালা ভেঙ্গে ঘরের মধ্যে রাখা জিনিষপত্রে কে বা কারা আগুন ধরিয়ে দেয় বলে ঘরগুলোর দেখাশুনার দায়িত্বে নিয়োজিত জহির আলী পরদিন সকালে ফোন করে আমাকে জানান। আমি গত ১ ফেব্রুয়ারী থেকে পারিবারিক কাজে অদ্যাবধি ঢাকায় অবস্থায় করছি। বিষয়টি আমার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল জামাল, পিআইও শিমুল আলী সাহেব এবং আমার এলাকার জনগণ জানেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে আমাকে আসামী করে মামলা হলো কি কারণে তা আমার বোধগম্য নয়।

রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে ঘর বরাদ্দ দিয়েছি আমি, ঘর গুলো বরাদ্দ দেয়ার এখতিয়ার একমাত্র প্রশাসনের, আমার না। গত ১১ ফেব্রুয়ারি ভোরে রাতে উপকারভোগী খাতেবুন বিবিকে সাথে নিয়ে আমি একটি কক্ষের দরজা ভেঙে ভেতরে অনধিকার প্রবেশ করে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দিয়ে পালিয়ে যাই। এসময় অন্যান্য ঘরগুলোতে বসবাসরত মানুষের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ফযরের নামাযে আসা মুসল্লিরা আমাকে ও উপকারভোগি খাতেবুন বিবিকে পালিয়ে যেতে দেখেন।

আমি ঢাকা থেকে কিভাবে আগুন দিলাম কিংবা কে দেখেছে তার নাম সংবাদে প্রকাশ করা দরকার ছিলো নয়কি? তাছাড়া যেখানে কোন মানুষ বসবাস করেন না তাহলে চিৎকার করলো কারা? এছাড়া ঘরে রাখা জিনিষপত্র পোড়ানোর ছবি প্রকাশ না করে কোন স্বার্থে কাকে খুশি করার জন্য সাংবাদিক ভাইয়েরা আমার ছবি প্রকাশ করলেন তা আমার বোধগম্য নহে।

আমি রাউৎগাঁও ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ২বারের নির্বাচিত মেম্বার। মেম্বার নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে আমি অত্যন্ত সততা ও নিষ্টার সাথে কাজ করে আসছি। আমার জনপ্রিয়তা দেখে একটি মহল ঈর্ষান্বিত হয়ে এবং আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ওই পক্ষ নানাভাবে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে আসছে।

আমি উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও অপসাংবাদিকতার তীব্র প্রতিবাদ করছি এবং প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার জন্য আমি প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানাচ্ছি।

মোঃ নোমান আহমদ
ইউপি সদস্য-১নং ওয়ার্ড-
রাউৎগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ, কুলাউড়া।

আশাশুনিতে ৬ দফা দাবীতে প্রধান মন্ত্রী বরাবর স্মারক লিপি প্রদান ও বিশাল মানববন্ধন

আশাশুনিতে ৬ দফা দাবীতে প্রধান মন্ত্রী বরাবর স্মারক লিপি প্রদান ও বিশাল মানববন্ধন

আহসান উল্লাহ বাবলু., আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধিঃ আশাশুনিতে টেকসই বেড়ী বাঁধ নির্মান, মনিকখালী ব্রীজ টু উপজেলা ভায়া পুরাতন ফেরীঘাট সংযোগ নির্মানসহ ৬ দফা দাবী আদায়ের মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। সোমবার সকালে আশাশুনি সদর বাজার টু উপজেলা পরিষদের মেইন ফটক পর্যন্ত প্রধান সড়কে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। আশাশুনি । উপজেলা ভূমিহীন সমিতির সভাপি সাংবাদিক এমএম সাহেব আলীর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা মৎস্যজীবি সমিতির সভাপতি রফিকুল ইসলাম মোল্যা, সহ-সভাপতি জিএম মুজিবুর রহমান, আশাশুনি প্রেসক্লাব সভাপতি জিএম আল ফারুক,ইউপি চেয়ারম্যান দীপঙ্কর কুমার সরকার দীপ, আব্দুল আলিম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আশরাফ, উপজেলা নাগরিক সমাজের যুগ্ম-সম্পাদক প্রদর্শক ইয়াহিয়া ইকবাল, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি ঢালী সামছুল আলম, সাবেক প্রধান শিক্ষক কামরুন্নাহার কচি, জেলা মৎস্যজীকি সমিতির সেক্রেটারী নিতাই ঢালী, সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির সম্পাদক শিবপদ মন্ডল,উপজেলা মৎস্যজীবি সমিতির সভাপতি  অনিল কৃষ্ণ মন্ডল, সাধারন সম্পাদক নাসির উদ্দীন, আশাশুনি বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মফিজুল ইসলাম লিংকন, সেক্রেটারী জাহিদুল ইসলাম বাবু প্রমুখ। পরে ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থদের পুনর্বাসন ও খাদ্য সহায়তা প্রদান, মানিকখালী ব্রীজ হতে সদর বাজার পর্যন্ত সংযোগ সড়ক নির্মান, ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে টেকসই বাঁধ নির্মান, সিএস ম্যাপ অনুযায়ী নদী ও খালের সীমানা নির্ধারণ করে অবৈধ দখল উচ্ছেদ ও খনন, মৎস্যজীবিদের তালিকা হালনাগাদ, উপজেলা রক্ষা বাঁধ টেকসই ভাবে নির্মাণ এবং আশাশুনি বাজারের স্থায়ী জায়গা নির্ধারণ ও স্বাস্থ্য সম্মত কসাইখানা নির্মানের দাবীতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারক লিপি ইউএনও মীর আলিফ রেজার কাছে হস্তান্তর করা হয়। 

প্রথম আলোক২৪ পত্রিকায় সাভার উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মোঃ রাশেদুল ইসলাম রাশেদ

প্রথম আলোক২৪  পত্রিকায় সাভার উপজেলা প্রতিনিধি  হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মোঃ রাশেদুল ইসলাম রাশেদ

নিউজ ডেস্কঃ তিনি দীর্ঘদিন ধরে দৈনিক কপোতাক্ষ  নিউজ এবং মানবাধিকার কন্ঠ পত্রিকায় কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি কপোতাক্ষ নিউজ কে  জানান, আল্লাহর অশেষ রহমতে আপনাদের দোয়ার কারণে আজ আমি প্রথম আলোক২৪ পত্রিকায় নিয়োগ পেয়েছি।  

অন্তরের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ জানাই প্রথম আলোক২৪ পত্রিকার সম্পাদক স্যার এডঃ মোকলেছুর রহমান মুকুল  যার কারণে আমার প্রতিভাকে প্রকাশ করার মাধ্যম খুঁজে পেয়েছি আমি আমার জীবনের সর্বোচ্চ টা দিয়ে কাজ করব দেশ এবং দশের পক্ষে।

 সর্বোপরি  সবার কাছে আমি দোয়াপ্রার্থী সকলে দোয়া করবেন, সকলে আমাকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করবেন যাতে আমি আরো উচ্চ শিখরে পৌছাতে পারি।

আশাশুনিতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রস্তুতিমূলক সভা

আশাশুনিতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রস্তুতিমূলক সভা

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ  আশাশুনিতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বিকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপসচিব উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন প্রকল্পের উপ-পরিচালক ড. মোঃ মোকতার হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আশাশুনি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মোস্তাকিম। এসময় কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, মোসলেমা খাতুন মিলি, উপজেলা পরিচালন ও প্রকল্প সমন্বয়কারী দেবু বিশ্বাস, কৃষি কর্মকর্তা রাজিবুল হাসান, পিআইও সোহাগ খান, ইউপি চেয়ারম্যান আ ব ম মোসাদ্দেক, স. ম সেলিম রেজা মিলন, আলমগীর আলম লিটন, দীপঙ্কর কুমার দ্বীপ, আব্দুল বাসেত হারুন চৌধুরী, আব্দুল আলিম মোল‍্যা, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি জিএম মুজিবুর রহমান, রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, প্রচার সম্পাদক বিএম আলাউদ্দিন  প্রমুখ। সভায় একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক ভাষা দিবস বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে সামাজিক দূরত্ব্ব্ব বজায় রেখে যথাযোগ্য মর্যাদার সহিত পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

আশাশুনিতে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

আশাশুনিতে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ আশাশুনিতে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।সোমবার বিকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মোস্তাকিম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন প্রকল্পের উপ-পরিচালক ড. মোঃ মোকতার হোসেন। আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজার সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন কালিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, মোসলেমা খাতুন মিলি, উপজেলা পরিচালন ও প্রকল্প সমন্বয়কারী দেবু বিশ্বাস, কৃষি কর্মকর্তা রাজিবুল হাসান, পিআইও সোহাগ খান, ইউপি চেয়ারম্যান আ ব ম মোসাদ্দেক, স. ম সেলিম রেজা মিলন, আলমগীর আলম লিটন, দীপঙ্কর কুমার দ্বীপ, আব্দুল বাসেত হারুন চৌধুরী, আব্দুল আলিম মোল‍্যা।

আশাশুনিতে জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন উপসচিব ডঃ মোঃ মোকতার হোসেন

আশাশুনিতে জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন উপসচিব ডঃ মোঃ মোকতার হোসেন

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ আশাশুনিতে জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন উপসচিব উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন প্রকল্পের উপ-পরিচালক ড. মোঃ মোকতার হোসেন। সোমবার বিকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। আশাশুনি উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজার সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন, আশাশুনি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মোস্তাকিম। এ সময় ড. মোঃ মোকতার হোসেন বলেন, আশাশুনি উপজেলায় জাইকার অর্থায়নে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ স্বচ্ছতার সাথে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সম্পন্ন করা হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, মোসলেমা খাতুন মিলি, উপজেলা পরিচালন ও প্রকল্প সমন্বয়কারী দেবু বিশ্বাস, কৃষি কর্মকর্তা রাজিবুল হাসান, পিআইও সোহাগ খান, ইউপি চেয়ারম্যান আ ব ম মোসাদ্দেক, স. ম সেলিম রেজা মিলন, আলমগীর আলম লিটন, দীপঙ্কর কুমার দ্বীপ, আব্দুল বাসেত হারুন চৌধুরী, আব্দুল আলিম মোল‍্যা প্রমুখ।

মধুপুরে দৈনিক আমার সংবাদের বর্ষপূর্তি উদযাপন

মধুপুরে দৈনিক আমার সংবাদের বর্ষপূর্তি উদযাপন

আঃ হামিদ মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ সারাদেশের ন্যায় দেশের জনপ্রিয় দৈনিক আমার সংবাদ প্রত্রিকার ৮ম বছর পুর্তি এবং ৯ম বছরে পদার্পন উপলক্ষে র‌্যালি, দোয়া মাহফিল আলোচনা সভা কেক কাটার মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন আয়োজন করা হয়েছে।
রবিবার(১৪ফেব্রুয়ারী)  বিকেল ৪টায়  প্রেসক্লাব মধুপুরের অফিস কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে।
অনুষ্ঠানে দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার মধুপুর উপজেলা প্রতিনিধি ও প্রেসক্লাব মধুপুর এর সভাপতি আঃ হামিদ এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মধুপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শরিফ আহমেদ নাছির।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মধুপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও মহিষমারা ইউপি চেয়ারম্যান কাজী আব্দুল মোতালেব, প্রেসক্লাব মধুপুরে সাধারণ সম্পাদক ও জয়যাত্রা টিভির মধুপুর প্রতিনিধি বাবুল রানা,  জাতীয় সাংবাদিক সংস্হার ধনাবাড়ী উপজেলা শাখার যুগ্ন সম্পাদক জহিরুল ইসলাম মিলন, জয়যাত্রা টিভির ধনবাড়ী উপজেলা প্রতিনিধি জাহীদুল কবীর জুয়েল, দৈনিক তথ্যধারা মধুপুর উপজেলা প্রতিনিধি সাইফুল ইসলাম, প্রেসক্লাব মধুপুরের কোষাধক্ষ ও চ্যানেল সেভেনটিনের মধুপুর উপজেলা প্রতিনিধি মতিয়ার রহমান সহ প্রেসক্লাব মধুপুরের সকল সদস্যগন এবং অন্যন্য প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ।

দ্য সিটি ব্যাংক লিমিটেডে লোক নিয়োগ দেয়া হবে

দ্য সিটি ব্যাংক লিমিটেডে লোক নিয়োগ দেয়া হবে

দ্য সিটি ব্যাংক লিমিটেডে 'অ্যাসিস্টেন্ট ম্যানেজার, ব্র্যান্ড অ্যান্ড কমিউনিকেশন' পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পারেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: দ্য সিটি ব্যাংক লিমিটেড

পদের নাম: অ্যাসিস্টেন্ট ম্যানেজার, ব্র্যান্ড অ্যান্ড কমিউনিকেশন

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিজনেস স্টাডিজ (মার্কেটিং) বিষয়ে স্নাতক/স্নাতকোত্তর
দক্ষতা: বিজ্ঞাপন সংস্থা বা মার্কেটিং বিভাগে ন্যূনতম ৩ বছর কাজের অভিজ্ঞতা
বাংলা-ইংরেজিতে যোগাযোগ দক্ষতা

বয়স: অনূর্ধ্ব ৩০ বছর

বেতন: আলোচনা সাপেক্ষ
কর্মস্থল: ঢাকা

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা www.thecitybank.com/home এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।
আবেদনের শেষ সময়: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১
তথ্যের উৎসঃ জাগোনিউজ


জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা নাগরপুর ইউনিটের সভাপতি ও সেক্রেটারি কোভিড-১৯ টিকা নিলেন

জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা নাগরপুর ইউনিটের সভাপতি ও সেক্রেটারি কোভিড-১৯ টিকা নিলেন

ডা.এম.এ.মান্নান, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা নাগরপুর ইউনিটের সভাপতি মো.সিরাজ আল মাসুদ ও সাধারন সম্পাদক মো.আজিজুল হক বাবু নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোভিড-১৯ টিকাদান সেন্টারে গিয়ে কোভিড-১৯ টিকা গ্রহন করলেন।  

আজ সোমবার,১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ খ্রি. দুপুরে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা নাগরপুর ইউনিটের সভাপতি মোঃ সিরাজ আল মাসুদ ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আজিজুল হক করোনা ভাইরাসের টিকা গ্রহন করেছেন।এ খবর নিশ্চিত করেছেন নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. রোকনুজ্জামান খান।

জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা নাগরপুর ইউনিটের সভাপতি মোঃ সিরাজ আল মাসুদ বলেন, আমি টিকা গ্রহণ করেছি, আপনারাও করুন । টিকা গ্রহন নিয়ে বিব্রত বা ভয়ের কিছু নেই। যারা বিভ্রান্তি ছড়ায় তারা আপনার মঙ্গল কামনা করে না।

সাধারণ সম্পাদক মোঃ আজিজুল হক বলেন, টিকা নেওয়ার পর তার শারীরিক অবস্থা স্বাভাবিক আছে। অন্যদেরও তিনি টিকা নিতে উৎসাহিত করছেন। পর্যায়ক্রমে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা নাগরপুর ইউনিটের সকল সদস্য টিকা গ্রহণ করবেন আশা করছি।

সাবেক যুবদল নেতা নূরুল ইসলাম চৌধুরী নূরুর বেপরোয়া চাঁদাবাজী মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকায়

সাবেক যুবদল নেতা নূরুল ইসলাম চৌধুরী নূরুর বেপরোয়া চাঁদাবাজী মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকায়

এস.এম অলিউল্লাহ স্টাফ রিপোর্টারঃ ঢাকা মতিঝিল,দিলকুশা বাণিজ্যিক  এলাকায় সাবেক যুবদল নেতার বেপরোয়া চাঁদাবাজী।মতিঝিল ০৯ নং ওয়ার্ডের ফুটপাতগুলোতে বিভিন্ন ধরনের ব্যবসা নিয়ে বসেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা।জীবন জীবিকার প্রয়োজনে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী ক্ষুদ্র ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করেন।তাদের ব্যবসার লাভের বড় অংশ নিয়ে যায় কিছু চিহ্নিত চাঁদাবাজরা।সাবেক ৩২ নং ওয়ার্ড,বর্তমান ০৯ নং ওয়ার্ড এর যুবলীগ নেতা নূরুল ইসলাম চৌধুরী  নূরু চিহ্নিত চাঁদাবাজদের অন্যতম।তিনি ফুটপাতের প্রতিটি দোকান থেকে বিল্লাল,সোহেল,ইব্রাহিম,মনা,
বাবুল সহ ১০/১২ জন লাইন ম্যানের মাধ্যমে প্রতিদিন চাঁদা আদায় করেন।প্রতিটি ফুটের দোকান থেকে বিভিন্ন চাঁদা,মাটি ভাড়া,নিরাপত্তা, অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ, ওয়াসার পানি এবং ময়লার নামে প্রতিদিন ১৫০ থেকে ২০০ টাকা আদায় করেন। সাবেক কাউন্সিলর মমিনুল হক সাঈদের সময় তিনি মতিঝিল, দিলকুশা এলাকার চাঁদাবাজী তার নেতৃত্বে করতেন।বর্তমান কাউন্সিলর মোজাম্মেল হক তার  চাঁদাবাজীর নেতৃত্ব দেন।তিনি সরকারি জায়গা দখল করে পূর্বানী হোটেলের পেছনে কয়েকটি দোকানঘর নির্মান করে ভাড়া দিয়েছেন।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সাধারণ ব্যবসায়ী অভিযোগ করে বলেন,কোন ব্যবসায়ী নূরুল ইসলাম চৌধুরীকে চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তখনই তাদের উপর নেমে আসে অত্যাচার।আদমজী সন্স এর জায়গা অবৈধভাবে দখল করলে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ঐ জায়গা উদ্ধার হয়।চাঁদা আদায়ের জন্য সে সব লাইন ম্যান রয়েছে তারা বলেন,প্রতিদিন চাঁদা আদায়ের টাকা তার কাছে জমা দিলে তিনি তাদের একটা মজুরী দেন।০৯নং ওয়ার্ডের বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কাজ পেয়েছিল এসিড মিশন নামের প্রতিষ্ঠান। সেই প্রতিষ্ঠান থেকে সাব টেন্ডারের মাধ্যমে বর্তমান কাউন্সিলের মধ্যস্থতায় বর্জ ব্যবস্থাপনার কার্যক্রম পরিচালনা করছেন তিনি। সিটি কর্পোরেশনের আইনের ব্যাতয় ঘটিয়ে কাজটি করছেন।সম্প্রতি আদমজী কোর্ট বিল্ডিং এর পুরাতন মালামালের টেন্ডার সিডিউল ড্রপ করার সময় তিনি তার সন্ত্রাসী বাহিনীর মাধ্যমে নিজের সিডিউল ড্রপ করেন।অন্য কেউ টেন্ডার ড্রপ করতে এলে তাঁর হাতে হেনস্থা হয়ে ফিরে যান।
সরকারি জায়গা অবৈধ ভাবে দখল করে ভাড়া দেয়ার বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের  প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ( অতিঃ সচিব) এ বি এম আমিন উল্লাহ নূরী বলেন,অচিরেই ফুটপাত থেকে অবৈধ দোকান উচ্ছেদ করার অভিযান পরিচালনা করা হবে।
নূরুর বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে ০৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোজাম্মেল হক গণমাধ্যমকে বলেন,আমিতো এটা জানিনা,তবে আপনারা সাংবাদিক মানুষ আপনারা তো জানেনই কে কার ছত্রছায়ায়। নূরুর অভিযোগ সম্পর্কে মুঠোফোনে তার নিকট জানতে চেয়ে ফোন করা হলে তার দুটি নাম্বারই বন্ধ পাওয়া যায়।
নূরু চৌধুরীর চাঁদাবাজী, টেন্ডার বাজী,এবং অবৈধ সরকারি জমি দখলের বিষয়ে ভুক্তভোগীরা প্রধানমন্ত্রী সহ সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

প্রকৌশলী তফসির আহমেদ এবার কুচিয়ামোড়া ইউনিয়নের ভোটারদের উন্নয়নের ভরসা

প্রকৌশলী তফসির আহমেদ এবার কুচিয়ামোড়া ইউনিয়নের ভোটারদের উন্নয়নের ভরসা

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরা সদর উপজেলার কুচিয়ামোড়া ইউনিয়ানের সাধারন ভোটারদের পছন্দের শীর্ষে অবস্থান করছেন নতুন প্রার্থী ইঞ্জি.তফছির আহমেদ। তিনি এবার আওয়ামীলিগের পক্ষ হতে দলীয় চেয়্যারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রতাশী ।

সরোজমিনে দেখা যায় ইউনিয়ানের তিনটি গুরুত্বপুর্ন অঞ্চল যথা পঞ্চ-পল্লি , কুল্লিয়া – কুচিয়ামোড়া, গাংনী-পাটখালী এই অঞ্চলের প্রায় প্রতিটি মানুষের মুখে আলোচনায় রয়েছে ইঞ্জি. তফছির আহমেদের নাম। অনেকেই বলছে এরকম শিক্ষিত মার্জিত ও বিনয়ী প্রার্থীই আমরা চাই । এলাকার গণ্যমান্য ও সাধারণ মানুষের পছন্দের তালিকারও শীর্ষে রয়েছেন তিনি।

তবে ইঞ্জি তফছির আহমেদের নিজ গ্রাম আমুড়িয়াতে রয়েছে চাপা গুঞ্জন, বর্তমানে সামাজিক দল দ্বারা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে থাকা গ্রামের একটি অংশ সরাসরি তফছির আহমেদের পক্ষে উন্মুক্ত ভাবে সমর্থন দিয়েছে এবং অপর অংশের অর্ধেকের বেশি মানুষের রয়েছে মৌন সমর্থন । সামাজিক দলের ভয়ে অনেকে সামনে না আসলেও দল মত নির্বিশেষে অমুড়িয়া গ্রামের ৭০ শতাংশ মানুষ তফছির আহমেদের পক্ষে সমর্থন দিচ্ছেন । অতীত ইতিহাস ও ঐতিহ্য জানা যায় নীজ গ্রামে যোগ্য প্রার্থী থাকলে আমুড়িয়া গ্রামের মানুষ নীজ গ্রামের প্রার্থীকেই ভেট দিবে । ইউনিয়ানের সর্বমোট ভোটের প্রায় এক তৃতীয়াংশই আমুড়িয়া গ্রামে অর্থাৎ একটি গ্রামেই ৪নং এবং ৫নং দুইটি ওয়ার্ড প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার ভোট রয়েছে । এই বিরাট ভোটের বৃহৎঅংশের সমর্থন তার পক্ষে থাকায় এবং ক্লিন ইমেজের কারনে কর্মী সমর্থকেরা বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী ।

তফছির আহমেদের পক্ষে স্থানীয় প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতাদের মধ্যেও ইতিবাচক সমর্থন রয়েছে , তারা বলছেন আওয়ামীলিগের পক্ষে যোগ্য প্রার্থী হিসেবে আমরা তাকে সমর্থন করছি এবং তফছির আহমেদ মনোনয়ন পান আমরা এটা চাই। অনেকেই তার পক্ষে প্রচার প্রচারণায় অংশ নিচ্ছে । শুভেচ্ছা পোষ্টার ও ব্যানারে প্রচারনা চালাচ্ছে।
এ বিষয়ে তফছির আহমেদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন "আমি সাধারণ মানুষের পাশে থেকে , তাদের জন্য কাজ করে যেতে চাই । দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় তবে আরও ভালোভাবে মানুষের পাশে থেকে কাজ করতে চাই "।

বড়লেখার মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাণী ভাতার শুভ উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

বড়লেখার মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাণী ভাতার  শুভ উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে প্রদান কার্যক্রমের আজ শুভ উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সারাদেশের ৫টি উপজেলায় উনি অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে কথা বলেন যারমধ্যে একটি উপজেলা ছিল বড়লেখা। বড়লেখা প্রান্তে উপস্থিত ছিলেন বীরমুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ ও প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধাদের ওয়ারিশরা, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি, জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ নাহিদ আহসান, পুলিশ সুপার জনাব মোহাম্মদ জাকারিয়া, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব মোঃ মিছবাহ উদ্দিন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব সোয়েব আহমেদ সহ বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা প্রমুখ। বড়লেখা প্রান্তে অনুষ্ঠান টি সঞ্চলনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বড়লেখা মোঃ শামীম আল ইমরান। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে এ প্রান্ত থেকে কথা বলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ সিরাজ উদ্দিন।

এ কেমন ব্যবহার কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার

এ কেমন ব্যবহার  কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃলুৎফর রহমান লাড্ডু। ক্রীড়াঙ্গনের খেলার মাঠ ও বাইরে ছেলে বুড়ো সব বয়সের মানুষই তাকে "লাড্ডু ভাই" নামেই চিনেন। কালীগঞ্জ বাসীর কাছে একজন সাদা মনের ব্যক্তি হিসাবেই পরিচিত। সেই সর্বজন শ্রদ্ধেও মানুষটার সাথেই চরম দূর্ব্যবহার করলেন কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ শামীমা শারমিন লুবনা।

অনুমতি না নিয়ে তার হাসপাতালের অফিসে কক্ষে প্রবেশ করায় ক্ষেপে গিয়ে গালিগালাজ সহ চরম দুর্ব্যবহার করেন ওই কর্মকর্তা। এতেও ক্ষ্যান্ত না হয়ে তিনি তার কাছে ক্ষমা চাওয়া সহ পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দিতেও উদ্যত্ব হন।

সোমবার সকালে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ লুবনার এমন অমানবিক আচরনের খবর শুনে ক্ষুব্ধ হয়েছে কালীগঞ্জে ক্রীড়াপ্রেমী মানুষ সহ সব পেশার মানুষেরা। তারা এহেন বিষয়টি স্থানীয় সাংসদ ও কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করেছেন।

কালীগঞ্জ উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক ও মোবারকগঞ্জ সুগার মিলের অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক লুৎফর রহমান লাড্ডু জানান, সোমবার সকালে তিনি কালীগঞ্জ হাসপাতালে গিয়ে করোনার টিকা গ্রহন করেন। এরপর তার অসুস্থ স্ত্রী ওই টিকা গ্রহন করতে পারবে কিনা জানতে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা অফিসে ঢোকা মাত্রই ক্ষেপে উঠেন ডাঃ লুবনা। শুরুতেই অনুমতি না নিয়ে বা কেন ঢুকলেন বলেই শুরু করেন মুখ খিস্তি গালি গালাজ।

তিনি ভুক্তভোগীকে উদ্দেশ্য করে দাম্ভিকতার সুরেই বলেন, ইউএনওর অফিস রুমে ঢুকতে অনুমতি না লাগলেও আমার অফিস রুমে অনুমতি ছাড়া ঢোকা যাবে না। এ সময় ভুক্তভোগি তার বিষয়টি খুলে বলতে গেলে ডাঃ লুবনা আরো ক্ষেপে বাইরে বের করে দেন তাকে। এরপর তিনি উচ্চস্বরে তার অফিসের ষ্টাফদের হাকডাক দিয়ে বলেন লোকটাকে ধরে আনতে বলেন। এবং তাকে নেশাখোর বলে পুলিশ ডেকে ধরিয়ে দিতে হবে বলে হুংকার দেন। এ নিয়ে জটলা বাঁধায় সেখানে জড়ো হয় হাসপাতালের ষ্টাফ সহ স্থানীয় লোকজন। এরপর ডাঃ লুবনা হাসপাতাল অভ্যন্তরে দাড়িয়ে থাকা লাড্ডুকে আবারো হেনস্থা করতে মুখ খিস্তি শুরু করেন। এবং বলেন, মাফ চাইতে হবে, নইলে হাসপাতাল থেকে বের হতে দিবেন না। এক পর্যায়ে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে প্রতিবাদ করলে ডাঃ লুবনা ক্ষ্যান্ত হয়।

পরে ডাঃ লুবনার এহন দূর্ব্যাহহারের বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে ফুসে উঠেন ক্রীড়াঙ্গন সহ সর্ব্বস্তরের মানুষ। প্রতিবাদের ঝড় উঠে শহরে। তাকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান স্থানীয় জনগণ। তারা তাৎক্ষনিক বিষয়টির সুষ্টু বিচারের জন্য কালীগঞ্জ ক্রীড়া ফেডারেশনের সভাপতি স্থানীয় সাংসদ আনোয়ারুল আজিম আনার ও কালীগঞ্জ উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সূবর্ণা রানী সাহাকে অবহিত করেন।

বিষয়টি নিয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শামীমা শিরিন লুবনা মুঠোফোনে সবুজদেশ নিউজ ডটকমের এ প্রতিবেদককে বলেন, অফিসে এসে কথা বলতে হবে। আমি অফিসে আছি। যেহেতু হাসপাতালে ঘটনা ঘটেছে, তাই এই প্রতিবেদককে হাসপাতালে যেতে বলেন। ফোনে এসব কথা বলা যাবে না।

ইউএনও সূবর্ণা রানী সাহা জানান, আমরা সরকারী কর্মকর্তাগন জনগনের সেবক। সব মানুষেরা আমাদের অফিসে আসতে পারে। স্বাস্থ্য কর্মকর্তা কর্তৃক লাড্ডু ভায়ের সাথে দূর্ব্যাবহারের ঘটনাটি মোটেও কাম্য নহে। তিনি এমপি মহোদ্বয়ের সাথে আলোচনা পূর্বক দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দেন।

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার জানান, লাড্ডু ভাই সর্বজন শ্রদ্ধেও একজন নীরিহ মানুষ। তার সাথে এহেন দূর্ব্যবহার আচরনের জন্য অবশ্যই তাকে জবাবদিহিতার মধ্যে আনা হবে।উল্লেখ্য, এর আগেও কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এই কর্মকর্তা সাংবাদিকসহ হাসপাতালের রোগীদের সাথে দুর্ব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে। গত ২৭ নভেম্বর বিভিন্ন গণমাধ্যমে "করোনায় হোটেলে না থেকেও চিকিৎসকদের বিল ৫৭৬০০' শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। করোনা প্রণোদনার ৩ লাখ টাকা হরিলুট হওয়ায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগে হইচই পড়ে যায়। কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শামীমা শিরিন এ টাকা তুলে নিয়েছেন বলে অভিযোগ। বিষয়টি দুর্নীতি দমন কমিশন তদন্ত করছেন।

ঝিনাইদহে সালিশ বৈঠকে মারধরের দুইদিন পর যুবকের মৃত্যু

ঝিনাইদহে  সালিশ বৈঠকে মারধরের দুইদিন পর যুবকের মৃত্যু

সম্রাট হোসেন ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পাকা গ্রামে সালিশ বৈঠকে মারধর করার দুই দিন পর ইমরান হোসেন (২২) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি ওই গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে।

ঘোড়শাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পারভেজ মাসুদ লিলটন খবরের সত্যতা স্বীকার করে জানান, গত শনিবার পাকা গ্রামের এক শিশু অপহরণ কে কেন্দ্র করে ওই গ্রামে সালিশ বৈঠক বসে। ওই বৈঠকে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার এক পর্যায়ে ইমরানের মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করা হয়। লাঠির আঘাতে ইমরান গুরুতর আহত হয়ে প্রথমে ঝিনাইদহ ও পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। দুইদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর সোমবার তার মৃত্যু ঘটে।

এ ঘটনায় আগেই ৩ জনকে আসামি করে ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি মামলা করা হয়।ঝিনাইদহ থানাার ওসি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি দুজনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

গ্রামবাসী জানিয়েছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ঘোড়শাল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সিদ্দিক ও চেয়ারম্যান গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এই বিরোধের জের ধরে ইমরানকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানিয়েছেন আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু হয়েছে।

বিশ্বনাথে আইন-শৃংখলা কমিটির মাসিক সভা সম্পন্ন

বিশ্বনাথে আইন-শৃংখলা কমিটির মাসিক সভা সম্পন্ন

আব্দুল হালিম,বিশ্বনাথ(সিলেট) প্রতিনিধি: সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির মাসিক সভা সম্পন্ন হয়েছে।

আজ সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১১ ঘটিকায় স্হানীয় উপজেলা বিআরডিবি কনফারেন্স হল রুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সভায় উপজেলার যানজট দূর করার জন্য অবৈধ দখলে থাকা 'সওজ ও এলজিইডি'র জায়গা উদ্ধার করে সড়ক প্রসস্থকরণ করার, মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেপ্তারে আইন-শৃংখলা বাহিনীকে আরো তৎপর হওয়ার, কৃষি জমির উপরি ভাগের মাটি ইটভাটায় আনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের, জনস্বার্থে পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে ওয়াশ ব্লক স্থাপনের এবং নতুন ও পুরাণ বাজার বণিক কল্যাণ সমিতির নির্বাচনের ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী উঠে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও পৌর প্রশাসক বর্ণালী পালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় জানানো হয় চাউলধনী হাওর নিয়ে চলমান সমস্যার সুষ্ট সমাধান না হওয়া পর্যন্ত হাওর এলাকার সকল প্রকার পুনঃখনন প্রক্রিয়া বন্ধ থাকবে। কেউ আইন ভঙ্গ করলে সাথে সাথে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। আর এবিষয় নিয়ে দ্বন্দে না জড়িয়ে প্রশাসনকে তথ্য দিয়ে সার্বিক সহযোগীতা করার আহবান করা হয়।
সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম নুনু মিয়া, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ কামরুজ্জামান, থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছয়ফুল হক, দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমির আলী, অলংকারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমুল ইসলাম রুহেল, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমদ, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আব্দুর রহমান মুসা, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বদরুন নাহার, আনসার-ভিডিপি কর্মকর্তা আমির হোসেন, উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সমরেন্দ্র বৈদ্য, বিশ্বনাথ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক প্রনঞ্জয় বৈদ্য অপু, সাংবাদিক আশিক আলী, নবীন সোহেল।
এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ওয়াহিদ আলী, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জুলিয়া বেগম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রমজান আলী, শিক্ষা কর্মকর্তা মহি উদ্দিন আহমদ, ভারপ্রাপ্ত সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া, উত্তর বিশ্বনাথ আজমদ উল্লাহ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ নেছার আহমদ, হাজী মফিজ আলী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ নেহারুন নেছা, সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ বিশ্বনাথ জোনাল অফিসের ডিজিএম ছাইফুল ইসলাম, বিশ্বনাথ ডিগ্রি কলেজের অধ্যাপক সঞ্জিত সাহা প্রমুখ।

কুড়িগ্রামে পুলিশের বিশেষ অভিযান মাদক জগত কাঁপছে

কুড়িগ্রামে পুলিশের বিশেষ অভিযান মাদক জগত কাঁপছে

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃপুলিশের বিশেষ অভিযানে সীমান্ত ঘেঁষা কুড়িগ্রামের মাদক জগত কাঁপছে। ইতোমধ্যে কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার সৈয়দা জান্নাত আরা'র নির্দেশে গত দেড় সপ্তাহের ব্যবধানে সদর থানা পুলিশ কর্তৃক পরিচালিত বিশেষ অভিযানের জালে আটকা পড়েছে এক যুবতি সহ ১৩ জন মাদক ব্যবসায়ী। এসময় গ্রেফতারকৃত আসামীদের কাছ থেকে হিরোইন ৬ গ্রাম, গাঁজা সাড়ে ১৪ কেজি, ফেনসিডিল ২শ' ৬ বোতল ও ইয়াবা ট্যাবলেট ৩৯ পিচ উদ্ধার করা হয়।
গ্রেফতারকৃত ১৩ মাদক ব্যবসায়ী হচ্ছে- শেখ সাদি (৪৫), আলতাব হোসেন (৪০),  ইলিয়াস মোঃ সোহেল রানা (৩৫), সাবিবর হাসান শিমুল (৩১), আমিনুর ইসলাম (৪০), সুজন মিয়া (৩০), একরামুল হক (৩৮), আলম (২৯) আশরাফুল আলম (৩৯), খোরশেদ আলম হুরকা (২৮), জসিম উদ্দিন (৪০), মনিকা ইসলাম মুন্নী (২০) ও রবিউল ইসলাম (২৯)। এদের সকলের বাড়ী কুড়িগ্রাম সদর থানার বিভিন্ন এলাকায়। এদের মধ্যে শেখ সাদির বিরুদ্ধে ১৩টি, আশরাফুল আলমের বিরুদ্ধে ৮টি এবং একরামুল হকের বিরুদ্ধে ৬ করে মাদক মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানায়। 
এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- মাদক বিরোধী পুলিশের কঠোর মনোভাব দেখে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীরা এখন গা ঢাকা দিয়েছে। এরপাশাপাশি প্রতি প্রকার অবৈধ মাদকের দাম এখন আকাশ চুম্বি। এমতাবস্থায় নিয়োমিত মাদক সেবীরা চরম বিপাকে পড়ে তারা এখন পাশ্ববর্তী জেলা লালমনিরহাট এবং রংপুরের দিকে ঝুকে পড়েছে।
 এব্যাপারে কথা হয়- কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ শাহরিয়ারের সাথে। তিনি বলেন- এসপি স্যারের নির্দেশে মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযান অব্যাহত রাখা হয়েছে। কুড়িগ্রাম সদর থানাকে মাদক মুক্ত করার লক্ষ্যে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
প্রসঙ্গক্রমে উল্লেখ্য- কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ শাহরিয়ার পরপর তিনবার কুড়িগ্রাম জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জের পুরস্কার জিতে নিয়ে হ্যাট্টিকের গৌরব অর্জন করেন।

নওগাঁর আত্রাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাত নারীর মৃত্যু

 নওগাঁর আত্রাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাত নারীর মৃত্যু

 মোঃ ফিরোজ হোসাইন, রাজশাহী ব্যুরো: নওগাঁর আত্রাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাত (৩৮) এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আত্রাইয়ের আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন ব্রিজের উপর কাটা পড়ে অজ্ঞাত নারীর মৃত্যু হয়। বেলা ১২টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে সান্তাহার রেলওয়ে থানা পুলিশ।
এ বিষয়ে আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে বলেন, সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে পারবর্তীপুর থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী উত্তরা ট্রেনে কাটা পড়ে এ নারীর মৃত্যু হয়।
স্থানীয়রা নিহতের লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দিলে সান্তাহার রেলওয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

ভাটার মাটি টেনে কোটি কোটি টাকার রাস্তা ধ্বংস, পরিপত্র জারির পরও নির্বিকার প্রশাসন

ভাটার মাটি টেনে কোটি কোটি টাকার রাস্তা ধ্বংস, পরিপত্র জারির পরও নির্বিকার প্রশাসন

সম্রাট হোসেন , ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহে ফসলি জমির উপরিভাগের মাটি কেটে ভাটায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ফলে আবাদি জমির পুষ্টি উপাদান কমে কৃষিপণ্যের ফলন বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন কৃষি কর্মকর্তারা। ঝিনাইদহ কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, ঝিনাইদহ অঞ্চলে তিন ফসলি আবাদি জমি রয়েছে। এসব জমিতে ধান, পাট, পেঁয়াজ, গম, ভুট্টা, সরিষা, মরিচ, বেগুন, ডালসহ বিভিন্ন জাতের কৃষিপণ্য উৎপাদন করা হচ্ছে। কয়েক বছর ধরে সরকারি নিয়ম অমান্য করে এসব আবাদি জমির উপরিভাগের মাটি কেটে ইট তৈরি করছেন ইটভাটার মালিকেরা। ফসল উৎপাদনের জন্য শতকরা ৫ ভাগ যে জৈব উপাদান দরকার, তা সাধারণত মাটির ওপর থেকে ৮ ইঞ্চি গভীর পর্যন্ত থাকে। কিন্তু ইটভাটার মালিকেরা মাটির উপরিভাগের এক থেকে দেড় ফুট পর্যন্ত কেটে নিচ্ছেন। এতে কেঁচোসহ উপকারী পোকামাকড় নষ্ট হচ্ছে। ঝিনাইদহ জেলায় ১২৯টি ইটভাটা রয়েছে। অনুমতি না থাকায় কিছুদিন আগে পরিবেশ অধিদপ্তর ১৮ টি ইটভাটা গুড়িয়ে দিলেও সেগুলো বিশেষ রফার মাধমে পুনরায় চালু করা হয়েছে। তথ্য নিয়ে জানা গেছে জেলায় মাত্র ৭টি ইটভাটার পুরোপুরি কাগজপত্র আছে। সরকারি বিধি মোতাবেক সর্বোচ্চ সাড়ে চার বিঘা অকৃষি জমিতে একটি ইটভাটা নির্মাণের নিয়ম থাকলেও ঝিনাইদহের ক্ষেত্রে তা মানা হচ্ছে। এ ছাড়া বেশির ভাগ ইটভাটা তৈরি করা হয়েছে জনবসতিপূর্ণ এলাকায়। পৌরসভার মধ্যেও ইটভাটা স্থাপনের নজীর রয়েছে। সরেজমিন দেখা গেছে ইটভাটা গুলোতে কয়লার পরিবর্তে পোড়ানো হচ্ছে হাজার হাজার মণ কাঠ। সবচে বেশি ক্ষতি করছে পাকা রাস্তার। এলজিইডি, জেলা পরিষদ এবং ত্রান ও পুনর্বাসন বিভাগের কোটি কোটি টাকার রাস্তা ভারি গাড়ি চলাচল করে নষ্ট করছে। ২০২০ সালের ৩ ডিসেম্বর ১৯৫২ সালের বিল্ডিং কনষ্ট্রাকশন এ্যক্টের ৩ ধারা মতে একটি পরিপত্র জারী করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগের (উন্নয়ন-২) উপ-সচিব জেসমিন পারভিন। গ্রামাঞ্চলে এলজিইডির রাস্তা রক্ষায় এই নির্দেশনা জারি করা হয়। ওই পরিপত্র জারির পর থেকে রাস্তার ধারে বা যে কোন স্থানে সরকারের পুর্বানুমতি ব্যতিত কেও পুকুর, কুপ, জলাশয়, সেচনালা খনন করতে পারবে না। জারিকৃত পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে যদি কেও এমন ভাবে পুকুর বা সেচ নালা খনন করে যার ফলে ভুমি, সড়ক বা পথের প্রতিবন্ধকতা বা ক্ষতি সাধন করে তবে তা ১৫ দিনে মধ্যে স্থানীয় জেলা প্রশাসক অপসারণ, খনন বা পুনঃখনন বন্ধ বা ভরাট করার আদেশ দিতে পারেন। এই আদেশ পালনে ব্যার্থ হলে বিল্ডিং কনষ্ট্রাকশন এ্যক্টের ১২ ধারা মোতাবেক দুই বছরের জেল, অর্থদন্ড বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন। ওই পরিপত্রে আরো বলা হয়েছে, পুকুর খনন করলে নিজ জমির ১০ ফুট অভ্যন্তরে জলাশয় সীমাবদ্ধ রাখতে হবে। সরকারী রাস্তার কিনারা থেকে ১০ ফুট দুরত্বে ও ৪৫ ডিগ্রি ঢালের পাড় রেখে পুকুর বা জলাশয় খনন করতে হবে। দন্ডবিধির ১৮৬০ এর ধারা ৪৩১ মোতাবেক সরকারী রাস্তার ক্ষতি সাধন ফৌজদারী দন্ডনীয় অপরাধ। এই আইনে ৫ বছরের কারাদন্ড, জরিমানা বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হওয়ার বিধান রয়েছে। ফলে সরকারী রাস্তার ক্ষতি সাধন হয় এমন কাজ করা যাবে না। কিন্তু ঝিনাইদহে প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই রাস্তার ক্ষতি সাধন করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তাদের মোটা অংকের ঘুষ দিয়ে ভাটা মালিকরা জমির মাটি কেটে গ্রামীন সড়ক দিয়ে ইটভাটায় নিয়ে যাচ্ছে নির্বিঘেœ। অথচ ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তাদের কোন সরকারী রাস্তা বা জমির ক্ষতি সাধন হচ্ছে কিনা তা জানানোর জন্য জেলা প্রশাসন থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একজন ইটভাটা মালিক জানান, প্রতিটি ভাটায় বছরে ৫০ থেকে ৫৫ লাখ ইট তৈরি হয়। প্রতি হাজার ইট তৈরি করতে প্রায় ৮৮ ঘনফুট মাটি প্রয়োজন। সেই হিসাবে একটি ইটভাটায় বছরে প্রায় পাঁচ লাখ ঘনফুট মাটি দরকার হচ্ছে। মালিকেরা এক হাজার ঘনফুট মাটি মাত্র ৫০০-৭০০ টাকায় কৃষকের জমি থেকে কেনেন। প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধা পর্যন্ত গ্রামাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা থেকে ট্রাক্টর, নসিমন, নাটাহাম্বারে মাটি পরিবহন করা হয়। এতে ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটে চলেছে। মাটি পরিবহনে মানা হয়না কোন নিয়ম কানুন। পাকা রাস্তায় মাটি পড়ে তা পথচারীদের বিড়ম্বনার সৃষ্টি করে। আর বারোটা বাজায় কোটি কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত সরকারী রাস্তার। ঝিনাইদহ ৬ উপজেলায় এমন এক'শ কোটি টাকার গ্রামীন পাকা রাস্তা এই মৌসুমে ধ্বংস করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ বিষয়ে একেবারেই নিশ্চুপ। শৈলকুপার বড়–লিয়া গ্রামের কৃষক আফজাল হোসেন বলেন, 'টাকার লোভে জমির মাটি বিক্রি করি। কিন্তু মাটিকাটা জমিতে ফসলের এতো বড় ক্ষতি হয়, তা জানতাম না। ফসলি জমি থেকে মাটি কাটা নিয়ে শৈলকুপা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আক্রাম হোসেন বলেন, 'কৃষিজমির উপরিভাগের মাটি কেটে নেওয়ায় পুষ্টি উপাদান কমে গিয়ে ফলন বিপর্যয়ের আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইটভাটা মালিকদের বিরুদ্ধে কৃষি বিভাগ থেকে ব্যবস্থা নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা লিজা জানান "সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে সাজা প্রদান করা হবে। এছাড়াও এ বিষয়ে জনসচেতনতা মূলক প্রচারনার ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে"।

নড়াইলের পল্লীতে নসিমন উল্টে ড্রাইভারের মৃত্যু

নড়াইলের পল্লীতে নসিমন উল্টে ড্রাইভারের মৃত্যু

মো: আজিজুর বিশ্বাস,স্টাফ রিপোর্টার নড়াইল।। নড়াইলের কালিয়া উপজেলার চাঁন্দেরচর এলাকায় নসিমন উল্টে ড্রাইভার মো: ইকবাল মোল্ল্যা( ৩৫)  পিং সাহেব মোল্ল্যা সাং চাঁন্দেরচর থানা নড়াগতী জেলা নড়াইল এর মৃত্যু  হয়েছে। নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, ১৫/২/২০২১ তারিখ : সোমবার সকাল ৯ টার দিকে ইকবাল চাঁন্দের চর থেকে নসিমনে যাত্রী ও মালামাল নিয়ে মহাজন বাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিল এরপর কাঠাদুর নামক ফাকা জায়গায় ব্রিজে উঠতে দিয়ে নসিমন উল্টে খালে পড়ে যায়। 

এরপরে স্থানীয় লোকজন ও যাত্রীদের সহযোগিতায় ইকবাল মোল্লা কে  লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  অানলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: মো: রেজয়ান তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  

উক্ত নসিমনে থাকা কোনো যাত্রীর ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে জানা যায়, ইকবালের এই মৃত্যুতে পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। 

নন্দীগ্রামে সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন মোফাজ্জল হোসেন

নন্দীগ্রামে সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন মোফাজ্জল হোসেন

আব্দুল আহাদ,নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি: করোনা মহামারীতে জনসচেতনতা ও সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বগুড়া জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলার ৪ নং থালতা মাঝগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও আ'লীগ নেতা মোফাজ্জল হোসেন মায়া পাচ্ছেন শেরে বাংলা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড  ২০২১।২৭ শে ফেব্রুয়ারি ২০২১ ইং রোজ শনিবার কেন্দ্রীয় কচি-কাঁচার মেলা ও মিলনায়তন ৩৭\এ কাজী মোতাহার হোসেন সড়ক সেগুনবাগিচা ঢাকা আঞ্চলিক ভাষা ও বাঙালী সংস্কৃতি পরিষদ কর্তৃক এ এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। উল্লেখ্য, বগুড়া জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলার ৪ নং থালতা মাঝগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও আ'লীগ নেতা মোফাজ্জল হোসেন মায়া করোনা প্রতিরোধে জনসাধারণ যাতে ঘরে থাকে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে কর্মহীন দরিদ্র পরিবারের মাঝে বাড়িয়ে দিয়েছেন সহযোগিতার হাত। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কারিগর জননেত্রী শেখ হাসিনার উপহার সামগ্রী সহ সরকারী ত্রাণ সামগ্রী এবং তার নিজস্ব অর্থায়নের খাবার বিলিয়েছেন অকাতরে, বিতরণ করেছেন নগদ অর্থও। তিনি এমন একজন জনপ্রতিনিধি যে, জনগণের কথা চিন্তা করে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই ছুটে চলেছেন ইউনিয়নের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। তারই স্বীকৃতি পাচ্ছেন মোফাজ্জল হোসেন মায়া 'শেরে বাংলা  গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড-২০২১' এর মাধ্যমে।

ফ্রি রক্তদান কর্মসূচী

ফ্রি রক্তদান কর্মসূচী

আরিফ হোসাঈন, ঢাকা জেলা প্রতিনিধিঃ ১৪ই ফেব্রুয়ারী বিশ্ব ভালোবাসা দিবস ও পহেলা ফাল্গুন উপলক্ষে স্বেচ্ছায় রক্তদান ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ কর্তৃক আয়োজিত ফ্রী ব্লাড গ্রুপিং এর আয়োজন করা হয়..! 
উক্ত প্রোগ্রামে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ঐতিয্য ইসলাম রাকিব। উপস্থিত ছিলেন ইন্জিনিয়ার সালাউদ্দিন। উপস্থিত ছিলেন বৃহত্তর ধানুয়াঘাটা সোসাইটির (পাবনা)  সভাপতি ইন্জিনিয়ার মনির। 
উপস্থিত ছিলেন, স্বেচ্ছায় রক্তদান ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ সংগঠনের প্রতিষ্ঠাকালিন সদস্য প্রতিক হাসান,মোঃ আরিফ হোসাঈন,  সামিউল আহান অন্তর,সাথীরা নওশিন,শাপলা আক্তার, 
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, স্বেচ্ছায় রক্তদান ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সহ-পরিচালক জুঁই আক্তার স্মৃতি,সভাপতিঃ সাইফুল নূর, 
সিনিয়র সহ-সভাপতি সুজন হোসেন, সহ-সভাপতি মোঃ জনি, সাধারণ সম্পাদক- হাফেজ নেয়ামত উল্লাহ
 সাংগঠনিক সম্পাদক -আরিফ হোসেন,
 যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক- মিলন হোসেন, সহ মহিলা বিষয়ক -সম্পাদিকা হামিদা রাহিমিন,
আরো ছিলেন কার্যকরী সদস্য আফরোজ আমিনা, মোহাম্মদ ফারুক সহ আরো অনেক স্বেচ্ছাসেবী বৃন্দ..!

স্থানঃটি এস এসি

সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ,,,  উক্ত প্রোগ্রামকে সুন্দর করে বাস্তবায়ন করার জন্য৷

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গণসংযোগে ব্যস্ত আমিনুর রহমান

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গণসংযোগে ব্যস্ত আমিনুর রহমান

স্টাফ রিপোর্টার: ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন এমপি প্রতিনিধি আমিনুর রহমান। জানা যায় যশোর জেলার  ঝিকরগাছা উপজেলার ১ নং গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভোটারের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন এবং তাদের খোঁজ খবর নিচ্ছেন অত্র ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ,বর্তমান এমপি প্রতিনিধি ও চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আমিনুর রহমান ।প্রতিনিয়ত ছুটে চলেছেন সাধারণ ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ।ব্যাস্ত সময় পার করছেন এই জনদরদি নেতা ,তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল (১৪ ফেব্রুয়ারি) রবিবার সন্ধ্যায় অত্র ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের  গোয়ালহাটি  গ্রামে গণসংযোগ ও মতবিনিময় করেছেন আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী গরিব, দুঃখীর বন্ধু জনপ্রিয় এই নেতা।   এই মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন অত্র ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুস  সামাদ, এমপি প্রতিনিধি আশরাফুল ইসলাম ময়না, আওয়ামী নেতা আব্দুল মাজিদ, ইমামুল হক, ভুট্টো,মিজান, আঃ করিম, আনোয়ার, যুবলীগ নেতা মহসীন আলী, আজিজুর রহমান সহ দেড় শতাধিক নেতাকর্মী।

ওয়েবোমেট্রিক্সের বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাংকিং-এ দেশে কুড়িতম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

ওয়েবোমেট্রিক্সের বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাংকিং-এ দেশে কুড়িতম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

জবি প্রতিনিধি:
স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদ ভিত্তিক শিক্ষা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান ওয়েবোমেট্রিক্সর বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাংকিং-২০২১ সালের (১৮তম সংস্কারে) প্রথম সংস্করণে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) বাংলাদেশ মধ্যে ২০ তম আর বিশ্ব র‌্যাংকিং এ ৩৯২৮ তম অবস্থানে রয়েছেন। জানুয়ারির এই সংস্করণে বিশ্বের দুই শতাধিকেরও বেশি দেশের ৩১ হাজার উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। তন্মোধ্যে দক্ষিণ এশিয়ার ৫ হাজার ৮৮৩টি এবং বাংলাদেশের ১৭৩ টি পাবলিক-প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ স্থান পেয়েছে। গতকাল ওয়েবোমেট্রিক্সের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের র‍্যাংকিং তৈরিতে প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষণ পদ্ধতি, বৈজ্ঞানিক গবেষণার প্রভাব, নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন ও সম্প্রসারণ, অর্থনৈতিক প্রাসঙ্গিকতা, সাম্প্রদায়িক সন্নিবেশ অর্থাৎ সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পরিবেশগত ভূমিকা বিবেচনা করে ওয়েবোমেট্রিক্স। প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট ছাড়াও তাদের গবেষক এবং তাদের প্রবন্ধ বিবেচনায় নিয়ে এটি তৈরি করে ওয়েবমেট্রিক্স। সেক্ষেত্রে ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট ৫০ শতাংশ, টপ সাইটেড গবেষকদের ১০ শতাংশ এবং টপ সাইটেড প্রবন্ধ ৪০ শতাংশ বিবেচনায় নিয়ে র‍্যাংকিং তৈরি করে এ শিক্ষা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি। জানুয়ারি মাসের ১ থেকে ২০ তারিখে মধ্যে এসব তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেছে ওয়েবমেট্রিক্স।

ওয়েবমেট্রিক্সের জানুয়ারি ২০২১ সংস্করণে বিশ্বসেরা তালিকার শীর্ষস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি। র‌্যাংকিংয়ের দ্বিতীয় যুক্তরাষ্ট্রের কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয়, তৃতীয় জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়। চতুর্থ ও পঞ্চম অবস্থানে যথাক্রমে ইয়েল ও ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া সান দিয়েগো। তালিকার শীর্ষ দশের মধ্যে ৯টিই যুক্তরাষ্ট্রের। তালিকায় ৬ষ্ঠ স্থানে রয়েছে কানাডার টরেন্টো ইউনিভার্সিটি। বিশ্বের সেরা ১০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ৯টিই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের।

বাংলাদেশের মধ্যে এ তালিকার শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ব র‌্যাংকিং ১৬৩৪), দ্বিতীয় অবস্থানে আছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ব র‌্যাংকিং ১৭০২)। তিনে রয়েছে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ব র‌্যাংকিং ২১৮১)। চার নম্বরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ব র‌্যাংকিং ২৩৫৭) পাঁচে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ব র‌্যাংকিং ২৬৬২)। ছয় নম্বরে নম্বরে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ব র‌্যাংকিং ২৬৬৪), সাত নম্বরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ব র‌্যাংকিং ২৭২১), আট নম্বরে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ব র‌্যাংকিং ২৭৭৩), নয় নম্বরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ব র‌্যাংকিং ২৮০৩) এবং ১০ নম্বরে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (বিশ্ব র‌্যাংকিং ৩১০১)।

অন্যদিকে দেশের শীর্ষ ১০০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পাবলিক ও প্রাইভেট কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়াও ৫টি সরকারি মেডিকেল কলেজের স্থান হয়েছে। তালিকার ৫৬তম স্থানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ, ৬৭তম স্থানে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ, ৭২তম স্থানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ, ৮২ ও ৮৩তম স্থানে যথাক্রমে ময়মনসিংহ ও স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ রয়েছে। তাছাড়া তালিকায় স্থান হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কবি নজরুল সরকারি কলেজেরও। প্রতিষ্ঠানটি ১৭৩তম স্থানে রয়েছে।

উল্লেখ্য যে, ২০০৪ সাল থেকে ওয়েবোমেট্রিক্স নিয়মিত বিশ্ববিদ্যালয়ের র‌্যাংকিং প্রকাশ করে আসছে। প্রতি বছর জানুয়ারি ও জুলাই মাসে তারা এ র‌্যাংকিং প্রকাশ করে।

বিশ্বনাথের কৃষ্ণপুরে বার্ষিক ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন

বিশ্বনাথের কৃষ্ণপুরে বার্ষিক ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন

আব্দুল হালিম,বিশ্বনাথ(সিলেট)প্রতিনিধি।
১৪ ফেব্রুয়ারি(রবিবার) সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ১নং লামাকাজী ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের ইসলামী সমাজ বিনির্মাণে ঐক্যবদ্ধ সংঘঠন হিলফু্ল ফুযুল ইসলামি যুব সংঘ কর্তৃক আয়োজিত গ্রামবাসীর মুর্দেগানদের ঈসালে সাওয়াব উপলক্ষে ৩য় বার্ষিক ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন।। 

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিট সৎপুর দারুল হাদিস কামিল মাদরাসার অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা শফিকুর রহমানের সাভাপতিত্বে ও হিলফুল ফুযুল ইসলামি যুব সংঘ কৃষ্ণপু-এর সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হালিমের পরিচালনায় শুরু হওয়া ওয়াজ ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে বয়ান রাখেন - সৎপুর দারুল হাদিস কামিল মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা ছালিক আহমদ। তিনি তাঁর বক্তবে এই ইসলামি সংগঠনের সকল আয়োজকবৃন্দের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি এই সংগঠনের উত্তর উত্তর সফলতা কামনা করে দোয়া করেন।

মাহফিলে প্রধান আকর্ষণ হিসেবে বয়ান রাখেন ফেঞ্চুগঞ্জের মাওলানা আব্দুল আহাদ জিহাদি।বিশেষ অতিথি হিসেবে বয়ান রাখেন - এলাহাবাদ ইসলামিয়া আলিম মাদরাসার আরবি প্রভাষক মাওলানা হরমুজ আলী,মাওলানা আজিজুর রহমান ধনপুরী,মাওলানা কামরুল হুদা সুনামগঞ্জী,মাওলানা জামাল উদ্দীন সৎপুরী,ক্বারী এখলাছুর রহমান কৃষ্ণপুরী।

মাহফিলে পবিত্র আল কোরআন থেকে তিলাওয়াত করেন - কৃষ্ণপুর জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব হাফিজ ক্বারী কয়েছ আহমদ।অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- হিলফুল ফুযুল ইসলামী যুব সংঘের সভাপতি ক্বারী মানিক মিয়া,সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আলী মামুন,সহ সভাপতি আব্দুস শহীদ,জালাল উদ্দীন, প্রচার সম্পাদক আবু সাঈদ,ধর্ম সম্পাদক মোস্তাকিম আহমদ,সদস্য আজির হোসেন,মজির হোসেন,বুরহান উদ্দীন, জায়েদ আহমদ,রুকন আহমদসহ প্রমুখ।।

যশোরের কেশবপুরের রহিমার প্রেমের টানে আমেরিকান ইঞ্জিনিয়ার

যশোরের কেশবপুরের রহিমার প্রেমের টানে আমেরিকান ইঞ্জিনিয়ার

সুমন হোসেন,  যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ
যশোরের কেশবপুর উপজেলার মেহেরপুর গ্রামের রহিমা খাতুনের ভালোবাসার কারণে নিভৃত পল্লীতে এসে সংসার পেতেছেন আমেরিকান নাগরিক ইঞ্জিনিয়ার ক্রিস হোগল। গত ৪ বছর ধরে তিনি বসবাস করছেন নিভৃত এ গ্রামে। 

করছেন কৃষিকাজ। নিজেকে মানিয়ে নিয়েছেন গ্রামীণ সংস্কৃতির সঙ্গে। রহিমা খাতুনের সঙ্গে জীবনের শেষ পর্যন্ত থাকতে চান। আমেরিকা থেকে মা ও প্রথম পক্ষের স্ত্রী সন্তানকেও নিয়ে আসতে চান এ দেশে। এ জন্য তৈরি করছেন বাড়িও। 

ক্রিস হোগল এখন মো. আয়ূব নামে পরিচিত। প্রায় এক যুগ ধরে রহিমা খাতুনের সঙ্গে তিনি সংসার করছেন। বর্তমানে মেহেরপুর মুন্সি মেহেরুল্লাহ মাজারের পাশে তাদের বসবাস।মেহেরপুর গ্রামের বাসিন্দা আশরাদ আলী মোড়ল জানান, বিদেশি মানুষটি এখানে বিয়ে করে অনেক দিন ধরে বসবাস করছেন। প্রায় ১০-১২ বিঘা ফসলি জমি ক্রয় করেছেন। 

তিনি ধান চাষ করেন। নিজে ক্ষেত থেকে ধান এনে ভ্যানে উঠিয়ে বাড়িতে নেন। এলাকার মানুষ তার বাঙালি হয়ে ওঠার দৃশ্য প্রতিদিন অবলোকন করেন। বিস্মিত হন ভালোবাসা মানুষকে কীভাবে পরিবর্তন করতে পারে ভেবে। মো. আয়ূবের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি প্রথমে সালাম দেন। এরপর তিনি জানান, তার মূল নাম ক্রিস হোগল।

তিনি জানান, তার বাড়ি যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানে। পেশায় তিনি পেট্রোলিয়াম ইঞ্জিনিয়ার। রহিমা খাতুনের সঙ্গে যখন দেখা হয় তখন তিনি ভারতের মুম্বাই শহরে থাকতেন। সেখানে তিনি অনিল আম্বানির রিলায়েন্স ন্যাচারাল রিসোর্সেস লিমিটেড কোম্পানিতে পেট্রোলিয়াম ইঞ্জিনিয়ার পদে কর্মরত ছিলেন। মুম্বাই শহরেই ঘটনাক্রমে রহিমার সঙ্গে তার দেখা হয়। এরপর তাদের সম্পর্ক ভালোবাসায় রূপ নেয় এবং এখন তারা দাম্পত্যজীবনে।

রহিমা খাতুন বলেন, শৈশবে তার বাবা আবুল খাঁ ও মা নেছারুন নেছার হাত ধরে অভাবের তাড়নায় পাড়ি জমান ভারতে। পশ্চিমবঙ্গের বারাসাতে তার মা অন্যের বাড়িতে কাজ করতেন। বাবা শ্রম বিক্রি করতেন। আর রহিমা সেই শৈশবে বারাসাতের বস্তিতে একা থাকতেন। ১৩-১৪ বছর বয়সে বাবা তাকে বিয়ে দেন। তারা জমি কিনেন। এর মধ্যে রহিমা খাতুন তখন তিন সন্তানের জন্ম দেন। কিন্তু অভাবের তাড়নায় তার স্বামী সেখানকার জমি বিক্রি করে দেন। রহিমা খাতুনকে একা ফেলে তার স্বামী নিরুদ্দেশ হয়ে যান। রহিমা খাতুন চলে যান জীবিকার সন্ধানে মুম্বাই শহরে।

শ্যামল বর্ণের রহিমা খাতুন আশ্রয় নেন পূর্বপরিচিত এক ব্যক্তির বস্তির খুপড়িতে।
রহিমা খাতুন দাবি করেন, হঠাৎ একদিন সন্ধ্যায় মুম্বাইয়ের রাস্তায় পরিচয় হয় ক্রিস হোগলের সঙ্গে। এক দৃষ্টিতে হোগল তার পানে তাকিয়ে ছিলেন। হিন্দিতে দু-এক লাইন কথা বলার পর তারা আবার দেখা করার সিদ্ধান্ত নেন। এভাবে ছয় মাস পর তারা বিয়ে রেজিস্ট্রি করেন। বিয়ের তিন বছর পর কর্মসূত্রে ক্রিস হোগল তাকে নিয়ে চীনে যান। সেখানে পাঁচ বছর ছিলেন। এরপর তারা বাংলাদেশে ফিরে আসেন। এবং যশোরের কেশবপুর উপজেলার মেহেরপুর রহিমা খাতুনের বাবার ভিটায় বসবাস শুরু করেন। 

মেহেরপুরে ফিরে আসার পর রহিমা খাতুনের বাবা আবুল খাঁ মারা যান। বাড়ির উঠানের পাশে তাকে কবর দেওয়া হয়। মোজাইক পাথর দিয়ে প্রায় ১২ লাখ টাকা খরচ করে বাবার কবর সংরক্ষণ করেন তারা। রহিমার মা নেছারুন নেছা এখনও জীবিত। রহিমার প্রথম স্বামীর তিনটি সন্তান তাদের সঙ্গে থাকে।ক্রিস হোগলের শখ বই পড়া ও মোটরসাইকেলে দূর ভ্রমণে যাওয়া। বর্তমানে একটি সুন্দর পরিবার পেয়ে সুখী এ দম্পতি।
ক্রিস হোগল বলেন, মিশিগান খুব সুন্দর শহর। আমেরিকান স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হয় অনেক আগে। সেখানে তার মা ও ছেলেমেয়ে রয়েছেন। এ গ্রামে একটি বাড়ি নির্মাণ করছেন। বাড়ির কাজ শেষ হলে আমেরিকা থেকে মা ও ছেলেমেয়েকে নিয়ে আসবেন এখানে। বহু দেশ ঘুরেছেন ক্রিস। তবে বাংলার সবুজ প্রকৃতি, ধানক্ষেত ও সরিষা ফুলের হলুদ রং তাকে বিমোহিত করে বারংবার। এই দেশে অনেক ভালো মানুষের সঙ্গে তার পরিচয় হয়েছে। ৪ বছর একটানা এখানে আছি। বাকি জীবনও এখানে কাটাতে চাই। 

ক্রিস হোগল এলাকার মানুষের কর্মসংস্থানের জন্য পোশাক কারখানা করাসহ আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থার কাজ করতে চান।

বড়লেখায় সাত কোটি টাকা ব্যয়ে দুটি ব্রীজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

বড়লেখায় সাত কোটি টাকা ব্যয়ে দুটি ব্রীজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা পৌরসভায় সৌর সড়কবাতি প্রকল্পের উদ্বোধন ও  পৌর পরিষদের দায়িত্বভার গ্রহণ উপলক্ষ্যে পৌর মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ১৪/০২/২০২১ইং:রবিবার 
পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।মাননীয় মন্ত্রী প্রায় সাত কোটি টাকা ব্যয়ে দুটি ব্রীজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন:-পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি।
উপস্থিত ছিলেন:-উপজেলা নির্বাহি অফিসার বড়লেখা মোঃ শামীম আল ইমরান এর সভাপতিত্বে অনষ্ঠানদ্বয়ে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, জনাব সোয়েব আহমদ, জনাব মোঃ তাজ উদ্দিন , ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ।

বড়লেখায় ৫০০ এতিম, পথশিশু ও রিক্সাচালকদের মাঝে খাবার বিতরণ

বড়লেখায় ৫০০ এতিম, পথশিশু ও রিক্সাচালকদের মাঝে খাবার বিতরণ

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় ইনসাফরক্তদান ও সমাজকল্যাণ সংস্থা  এর আয়োজনে ১৪/০২/২০২১ইং: রোজ রবিবার ০৪.০০ ঘটিকার সময় বড়লেখা রেলওয়ে মাঠে ও বড়লেখা বাজারে ৫০০ এতিম, পথশিশু ও রিক্সাচালক  ভাইদের মাঝে খাবার বিলিয়ে দেওয়া হয়।একই সাথে উপস্থিত ছিলেন সকল দায়িত্বশীলবৃন্দ।

বড়লেখায় রাস্তার পুনরায় নির্মান কাজের দাবিতে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের সাথে সাক্ষাত

বড়লেখায় রাস্তার পুনরায় নির্মান কাজের দাবিতে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের সাথে সাক্ষাত

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ১নং বর্ণি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড সৎপুর গ্রামের রাস্তার পুনরায় নির্মান কাজের দাবিতে দাবি নিয়ে মাননীয় মন্ত্রী মহুদয়ের সাথে দেখা করলেন বর্ণি ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি নৌকার প্রতাশী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জনাব শামীম আহমদ,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযুদ্ধা জনাব আব্দুল জলিল সাহেব,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক জনাব নাজমুল ইসলাম সফাত মাষ্টার,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্তমান সভাপতি জনাব নিজাম উদ্দিন সাহেব,বর্ণি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও বড়লেখা উপজেলা যুবলীগের সাবেক সদস্য জনাব নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

দশ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বিদ্যুৎ লাইনের উদ্বোধন ও চেক বিতরণ

দশ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বিদ্যুৎ লাইনের উদ্বোধন ও চেক বিতরণ

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় প্রায় সাড়ে দশ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৬৯ দশমিক ৯২৪ কিলোমিটার বিদ্যুৎ  লাইনের উদ্বোধন করেন।
পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি।

 ১ হাজার ৬৬০ পরিবার বিদ্যুৎ সুবিধা পাবে। প্রথম ধাপে বিদ্যুৎ সংযোগ পেয়েছে ২১৬ পরিবার। 
অপরদিকে একই অনুষ্ঠানে সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়িত পরিবেশ মন্ত্রী ৯৩ জন প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মাঝে ১১ লক্ষ টাকার শিক্ষা উপবৃত্তির চেক এবং প্রতিবন্ধীদের মাঝে সহায়ক উপকরণ হিসেবে ১০টি হুইল চেয়ার, ২টি হেয়ারিং এইড, ৫ টি সাদাছড়ি বিতরণ করেন।এছাড়াও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের পরিচয়পত্র সুবর্ণ নাগরিক কার্ড এবং বেদে, দলিত, হরিজনসহ অনগ্রসর সম্প্রদায়ের ১৫ জনকে নতুন বই প্রদান করেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন:-পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি।
উপস্থিত ছিলেন:-উপজেলা নির্বাহি অফিসার বড়লেখা মোঃ শামীম আল ইমরান এর সভাপতিত্বে অনষ্ঠানদ্বয়ে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, জনাব সোয়েব আহমদ, জনাব মোঃ রফিকুল ইসলাম সুন্দর, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, বড়লেখা উপজেলা শাখা। জনাব মোঃ তাজ উদ্দিন , ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ বড়লেখা প্রমুখ।

আওয়ামীলীগের মনোয়নের দৌড়ঝাঁপে সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম

আওয়ামীলীগের মনোয়নের দৌড়ঝাঁপে সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম

নাগরপুর (টাঙ্গাইল)উপজেলা প্রতিনিধিঃ আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নাগরপুর উপজেলার ৯ নং মামুদনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জনাব শহিদুল ইসলাম নৌকা প্রতিকে চেয়ারম্যান পদে লড়তে চান,এরই ধারাবাহিকতায় তিনি মামুদনগরের বিভিন্ন গ্রাম ও  হাট বাজারে গনসংযোগ  করছেন।জনাব শহিদুল ইসলামের রাজনৈতিক বিবরণী -ধর্মবিষয়ক সম্পাদক নাগরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ,সাবেক যুগ্ম সাধারন সম্পাদক উপজেলা আওয়ামীলীগ,সাবেক আহবায়ক নাগরপুর উপজেলা আওয়ামীস্বেচ্ছাসেবকলীগ,সাবেক আহবায়ক নাগরপুর উপজেলা কৃষকলীগ, সাবেক সভাপতি নাগরপুর উপজেলা ছাত্রলীগ,সাবেক সভাপতি নাগরপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ।জনাব শহিদুল ইসলাম বিভিন্ন গ্রাম হাটবাজার ঘুরে সকলের দোয়া চান সেই সাথে তিনি বলেন সকলকে সাথে নিয়ে মামুদনগর ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ইউনিয়ন পরিষদ গড়ে তুলা তার প্রধান দায়িত্ব, গ্রামের সার্বিকউন্নয়নে সকলের পাশে থেকে কাজ করার প্রত্যয় ইচ্ছা প্রকাশ করেন,
তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আকুল আবেদন করেন যাতে এইবার তাকে নৌকা প্রতিকে মনোয়ন দিয়ে মামুদনগর ইউনিয়ন বাসীর  পক্ষে কাজ করার সুযোগ করে দেন।

সর্বজনীন প্রাণের উৎসবে রূপ নিচ্ছে বসন্ত

সর্বজনীন প্রাণের উৎসবে রূপ নিচ্ছে বসন্ত

বিনোদন ডেস্কঃ সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, পহেলা বৈশাখ দল-মত-নির্বিশেষে বাঙালির সবচেয়ে বড় অসাম্প্রদায়িক উৎসব। শহর-নগর-বন্দর থেকে শুরু করে গ্রামের পাড়া-মহল্লা সর্বত্র ধনী-গরীব সবাই স্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রাণের এ উৎসবে মেতে ওঠে। সে ধরণের প্রাণের উৎসবে রূপ নিচ্ছে বসন্ত উৎসব।
প্রতিমন্ত্রী গতকাল বিকালে রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নন্দনমঞ্চে 'বসন্ত উৎসব ১৪২৭ বঙ্গাব্দ' উপলক্ষে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
প্রধান অতিথি বলেন, বরাবর ১৩ ফেব্রুয়ারি বসন্ত উৎসব উদযাপিত হলেও গত বছর বাংলা একাডেমির সংশোধিত বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী বসন্ত উৎসব এখন থেকে ১৪ ফেব্রুয়ারি উদযাপিত হবে। চল্লিশোর্ধ্ব বয়সী সবাইকে দ্রুত টিকা নেয়ার আহবান জানিয়ে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি মন্ত্রিসভার দ্বিতীয় সদস্য ও সর্বমোট সপ্তম ব্যক্তি হিসেবে গত ২৮ জানুয়ারি ২০২১ তারিখে কোভিড-১৯ টিকা গ্রহণ করেছি। এটি ঝুঁকি ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মুক্ত একটি নিরাপদ টিকা। তিনি বলেন, আমরা করোনাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছি কিন্তু এখনো সম্পূর্ণ নির্মূল করতে পারিনি। সেজন্য সবাইকে এখনো স্বাস্থ্যবিধি মেনে সতর্কতার সঙ্গে চলাফেরা করতে হবে। 
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী'র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সচিব মো. নওসাদ হোসেন।
আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে দেশবরেণ্য শিল্পীদের অংশগ্রহণে সমবেত সংগীত, নৃত্যানুষ্ঠান ও ব্যান্ডদল 'স্পন্দন' কর্তৃক ব্যান্ডসংগীত পরিবেশিত হয়।