কুমিল্লার বাঙ্গরা বাজার থানার ওসিসহ মোট ১৪ জন পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত

কুমিল্লার বাঙ্গরা বাজার থানার ওসিসহ  মোট ১৪ জন পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত





 ব্যুরো চিফ, কুমিল্লা

 : কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানার ওসিসহ মোট ১৪জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। 
 বুধবারে  নতুন করে বাঙ্গরা বাজার থানার পুলিশ সদস্য ৬জন ও অপর দু’জন উপজেলার রামচন্দ্রপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের জসমন্তপুর গ্রামের।

বুধবার বিকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ড. সিরাজুল ইসলাম মানিক বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এনিয়ে বাঙ্গরা বাজার থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান তালুকদার ও এ এস আই জসিম উদ্দিনসহ এ থানায় সর্বমোট ১৪ জন পুলিশ সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

গত মে মাসে সর্বপ্রথম বাঙ্গরা বাজার থানায় একজন পুলিশ সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন পরে তার সংস্পর্শে আসা পুলিশ সদস্যদের নমুনা সংগ্রাহ করে তা পরীক্ষার জন্য কুমিল্লা পাঠানো হয়। গত ৪ জুন বাঙ্গরা বাজার থানায় আরো ৭জন পুলিশ সদস্যের করোনা পজেটিভ আসে। তারই ধারাবাহিকতায় থানার সকল পুলিশ সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করে আবারো পরীক্ষার জন্য কুমিল্লায় পাঠানো হয়। সেখান থেকে বুধবার বিকেলে থানার ওসিসহ নতুন করে আরো ৬ জনের করোনা পজেটিভ আসে।

এখন পর্যন্ত এ উপজেলায় সর্বমোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৭১জন। এর মধ্যে
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নাজমুল আলমও আছেন।

শৈলকুপায় করোনায় মৃত্যু-১!

শৈলকুপায় করোনায় মৃত্যু-১!





সম্রাট হোসেন শৈলকুপা (ঝিনাইদহ)উপজেলা প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার কাঁচেরকোল গ্রামের কাজী এ কে এম নিজাম উদ্দীন (৫৪) নামের এক ব্যাক্তির করোনায় মৃত্যু হয়েছে।সে ওই গ্রামের কাজী এ কে এম নাজিম উদ্দীনের ছেলে। তিনি পেশায় একজন ব্যবসায়ী ছিলেন। তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকা কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে গতকাল মারা যাই। 

আজ সকালে তার নিজ গ্রামে পারিবারিক গোরস্থানে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ইসলামিক ফাউণ্ডেশন এর সহযোগিতায় তাকে দাফন করা হয়।

জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গৃহিত

জাতীয় সংসদে  সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গৃহিত




ডেস্ক রিপোর্টঃ

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণে বাংলাদেশ সহ বিশ্বের দেশে দেশে ব্যাপক প্রাণহানি ও ঢাকা-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান মোল্লার মৃত্যুতে আজ সংসদে সর্বসম্মতভাবে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এই শোক প্রস্তাব উত্থাপন করেন।

সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে শোক প্রস্তাবের উপর আলোচনায় অংশ নেন।

একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য হাবিবুর রহমান মোল্লা গত ৬ জুন সকাল নয়টা পঞ্চাশ মিনিটে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর।

এছাড়া, আটজন সাবেক সংসদ-সদস্য ও একজন সাবেক গণপরিষদ সদস্যের মৃত্যুতে সংসদে শোক প্রকাশ করা হয়। মৃত্যুবরণকারী সাবেক সংসদ সদস্যরা হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়ালিউর রহমান রেজা, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক খন্দকার আসাদুজ্জামান, জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মমতাজ বেগম, আলহাজ্ব মকবুল হোসেন, জহিরুল ইসলাম, কামরুন নাহার পুতুল, সাবেক প্রতিমন্ত্রী আনোয়ারুল কবির তালুকদার, এম এ মতিন ও সৈয়দ রাহমাতুর রব ইরতিজা আহসান।

এছাড়া, এমিরেটাস অধ্যাপক ও উপমহাদেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. আনিসুজ্জামান, ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার সহধর্মিণী আনোয়ারা রাব্বী, পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক ও সাবেক চিফ হুইপ আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ এমপির সহধর্মিণী বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাহান আরা বেগম, অবিভক্ত বাংলার প্রথম প্রধানমন্ত্রী শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হকের পুত্রবধূ, সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য এ কে ফাইজুল হকের স্ত্রী মোসাম্মৎ মরিয়ম বেগম, রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপির বড় ভাই এবিএম ফজলে রাব্বি চৌধুরী, সংসদ সদস্য গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকারের পিতা সুশান্ত সরকার, সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও সরকারি কর্মকমিশনের চেয়ারম্যান ড. সাদাত হুসাইন, জাতীয় অধ্যাপক ও খ্যাতিমান প্রকৌশলী জামিলুর রেজা চৌধুরী, স্বনামধন্য শিক্ষাবিদ ও ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সানবিমস স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ নিলুফার মঞ্জুর, একুশে পদক প্রাপ্ত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের প্রাক্তন অধ্যাপক ড. মজিবর রহমান, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশের চেয়ারম্যান বিশিষ্ট আলেম কাজী মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম হাশেমী, সাবেক জাতীয় ফুটবলার ও ঢাকা আবাহনী লিমিটেডের পরিচালক গোলাম রাব্বানী হেলাল, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত সুরকার, সংগীত পরিচালক এবং কণ্ঠশিল্পী আজাদ রহমান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুল মোনেম লি. এর চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল মোনেম এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনের প্রথম নারী ক্যামেরাম্যান রোজিনা আক্তারের মৃত্যুতে সংসদ গভীর শোক প্রকাশ করেছে।
এছাড়া, প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশে-বিদেশে যে সকল ডাক্তার, স্বাস্থ্যকর্মী, প্রশাসন, পুলিশের সদস্য, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, গণমাধ্যমকর্মী, ব্যবসায়ী ও সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং অন্যান্য সরকারি-বেসরকারি কর্মচারী মৃত্যুবরণ করেছেন, তাদের মৃত্যুতে সংসদ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়েছে।

সাম্প্রতিক ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তা-বে বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গসহ বিভিন্ন স্থানে নিহতদের স্মরণে জাতীয় সংসদ গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছে।

এছাড়া, দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে করোনা আক্রান্ত ও দুর্ঘটনায় হতাহতদের স্মরণে জাতীয় সংসদ গভীর শোক প্রকাশ করে। এসময় সকল বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়।
এর আগে শোক প্রস্তাবের উপর আলোচনায় অংশ নেন সরকারি দলের বেগম মতিয়া চৌধুরী, আ স ম ফিরোজ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, জাসদের হাসানুল হক ইনু ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গাঁ।

শোক প্রস্তাবের উপর আলোচনা শেষে মৃত্যুবরণকারীদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করে মোনাজাত করা হয়। এর আগে তাদের স্মরনে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

নৌকা থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

নৌকা থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু




রিয়াজুল করিম রিজভী স্টাফ রিপোর্টার চট্টগ্রাম

সন্দ্বীপ উপজেলার গাছুয়া ইউনিয়নের মোঃ আরিফ (২১)।আজ দুপুর ২ টার পর সন্ধীপ এর পূর্বে সন্ধীপ চ্যানেল নদীতে এক নৌকাতে দূর্ঘটনা বসত শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করে পৃথিবী থেকে চলে যায়।

মোঃ আরিফ সন্ধীপ এর গাছুয়া ঘাট মাঝির হাট বাজার এ মিউজিক লাইট সাওন্ড বক্স এবং অন্য অন্য কিছু জিনিস ভাড়া দিয়ে জিবিকা নির্বাহ করতেন। সাম্প্রতিক সময়ে মোঃ আরিফ জিবিকা নির্বাহের জন্য নৌকায় হেল্পার হিসেবে কাজ শুরু করেন।

নৌকায় কাজ করে কিছুদিন চলতে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে যাবে।তা হতাশার পুরো গ্রাম বাসির কাছে।
মোঃ আরিফ বিকেল চারটায় নৌকায় চলা অবস্থায় কাজ করতে ছিল।এই সময় হঠাৎ সে কাজ করতে গিয়ে ধাক্কা খেয়ে নৌকা থেকে পড়ে যায়।

কাজ অবস্থায় ধাক্কা খাওয়ার ফলে হয়ত তার সাধারণ সেন্স হারিয়ে ফেলে।চরম দূর্ঘটনায় সে নৌকার ফাঁকার নিচে চলে যায়। এতে তার জীবন নির্মম ভাবে পৃথিবী থেকে চলে যায়।

তাকে নদী থেকে তোলার পড় সাথে সাথে চট্রগ্রাম নিয়ে যাওয়া হয়। বিকাল চারটা নাগাদ চট্টগ্রাম এ যাওয়ার পথে নদী পেরিয়ে যাওয়ার পর সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।তার লাশ এখন সন্ধীপ নিয়ে আসা হচ্ছে। আজকে রাতের মধ্যে হয়ত তাকে সমাধি দেওয়া হবে।

মোংলায় সরকারি চাল জব্দ ও জড়িতদের আটক নিয়ে চালবাজী

মোংলায় সরকারি চাল জব্দ ও জড়িতদের আটক নিয়ে চালবাজী




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা   
 শেখ হাসিনার বাংলাদেশ ক্ষুধা হবে নিরুদ্দেশথ লেখা ও খাদ্য অধিদপ্তরের সীল সম্বলিত সরকারি চাল জব্দ ও জড়িত ব্যক্তিদের আটক নিয়ে চলেছে টালবাহানা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থল থেকে তাৎক্ষনিক ৮০ বস্তা চাল জব্দসহ এর সাথে জড়িত এক নারীকে আটকের নির্দেশ দিলেও রহস্যজনক কারণে চাল জব্দ ও ওই নারীকে আটক করা হয়নি। উল্টো চাল পাচারের সাথে জড়িত ব্যক্তিকে আটক ও চাল জব্দ না করেই স্থানীয় ইউপি মেম্বরের জিম্মায় দেয়া হয়। সরকারি চাল জব্দ ও জড়িতকে আটক নিয়ে টালবাহানার ঘটনাটি ঘটেছে মোংলার দক্ষিণ চাঁদপাই গ্রামে। 

সরকারী চাল পাচার ও মজুদের খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাতে মোংলা শহরতলীর দক্ষিণ চাঁদপাই এলাকায় অভিযান চালায় স্থানীয় প্রশাসন। ঘটনাস্থল থেকে ৮০ বস্তা চাল জব্দ এবং  ঘটনাস্থলে এক নারীকে পাওয়া গেলে তাকে আটকের নির্দেশ দেন ইউএনও মোঃ রাহাত মান্নান। এ বিষয়ে তিনি বলেন, এ চাল দুর্গন্ধযুক্ত, তবে এ চাল কোনভাবেই মাছ কিংবা পশু খাবার হিসেবে ব্যবহার ও বেঁচা কেনা যাবে না। যেহেতু দুর্গন্ধযুক্ত সেহেতু এগুলো ডাম্পিং করার কথা। তারপরও এ চাল কিভাবে এখানে এসেছে কে বা কারা এনেছে তা পুলিশ তদন্ত করে খঁুজে বের করে ব্যবস্থা নিবেন। 

তবে ঘটনাস্থলে যাওয়া পুলিশ কর্মকর্তা এস আই মোঃ আহাদ বলেন, এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ না করায় থানায় সাধারণ ডায়েরী হয়েছে। আর চাল ওই মহিলার জিম্মায় রয়েছে।

এদিকে চাল পাচারের ঘটনায় ইউএনও মোঃ রাহাত মান্নান মোংলা সরকারী খাদ্য গুদামের ইনচার্জ মো: মমিনুল ইসলামকে বাদী হয়ে থানায় মামলা করার কথা বললেও মামলা তিনি মামলা দিতে অনিহা প্রকাশ করেন। 

খাদ্য অধিদপ্তরের কর্মকতার্ মো: মমিনুল ইসলাম বলেন, উর্ধ্বতন কর্মকর্তার অনুমতি ছাড়া আমি কিছুই করতে পারবো না। 

চাল পাচারের সাথে জড়িত উজ্জল ফকির (৩২) এবং তার মা পেয়ারা বেগম (৫০) বলেন, পৌর শহরের ফেরিঘাট সংলগ্ন জনৈক ফারুক ডিলারের বার্জ (নৌযান) হতে তারা এ চাল কিনে এনেছেন। চাঁদপাই মাজারের সামনের একটি দোকানে এ চাল বিক্রিও করেন। তবে ফেরিঘাট সংলগ্ন যে নৌযান থেকে এ চাল পাচার করা হয়েছে রহস্যজনক কারণেই সেখানেও কোন অভিযান চালায়নি প্রশাসন। নৌযানে অভিযান না চালানো, নৌযান হতে জিজ্ঞাসাবাদে কাউকে আটক না করা, চাল পাচারকারী চক্রের সদস্যকে হাতে নাতে পেয়েও ছেড়ে দেয়া এবং চাল জব্দ না করার বিষয়টি শহর জুড়ে ব্যাপক গুঞ্জনের জন্ম দিয়েছে। 

কয়রায় হরিনখোলা বেঁড়িবাঁধ মেরামতের কাজে -এমপি বাবু

কয়রায় হরিনখোলা বেঁড়িবাঁধ মেরামতের কাজে  -এমপি বাবু




মোহাঃ ফরহাদ হোসেন কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ
   
খুলনার কয়রা উপজেলার সুপার সাইক্লোন ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে  সর্বদা পাশে থেকে ভেঙ্গে যাওয়া ঘাটাখালি বেঁড়িবাঁধ মেরামতে স্থানীয় মানুষের সাথে কাজে সহযোগীতা, পরামর্শ ও  নির্দেশনা  দিয়েছেন খুলনা-৬ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু। বুধবার সকালে সাত টায়  প্রায়  ৮ হাজার মানুষের সাথে বাঁধ মেরামত কাজে অংশগ্রহন করেন তিনি। এর আগের দিন এলাকায় মাইকিং করে স্থানীয় মানুষকে বাঁধের কাজে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়। বুধবার সকালে সে আহ্বানে সাড়া দিয়ে কয়রা উপজেলা সদর ও আশপাশের এলাকার সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দোকানপাট বন্ধ রেখে বাঁধ মেরামত কাজে অংশ নেয় হাজার হাজার মানুষ।স্থানীয় এলাকাবাসীর সাথে স্থানীয় রাজনৈতিক সংগঠন আওয়ামীলীগ, জনপ্রতিধি,ছাত্রলীগ, রাজনৈতিন বিভিন্ন সংগঠন,ছাত্র সংগঠন, সামাজিক সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থিরাও বাঁধ মেরামতে এগিয়ে আসে। যতদিন ভাঙ্গনে এলাকা প্লাবিত থাকবে ও  করোনাভাইরাস মহামারির সঙ্কট না কাটবে, ততদিন সরকার ও  নিজ ব্যক্তি উদ্যোগে  জনগণের পাশে থেকে কাজ করে যাবে বলে পুনর্ব্যক্ত করে গ্রামবাসির সাথে বেঁড়িবাধে কাজ করার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে
খুলনা ০৬ সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান  বাবু  বলেছেন, সঙ্কট যত গভীরই হোক না কেন জনগণ ঐক্যবদ্ধ থাকলে তা উৎড়ানো কোন কঠিন কাজ নয়।ঝড়-ঝঞ্ছা-মহামারি আসবে। সেগুলো মোকবিলা করেই আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে হবে। যে কোনো দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রয়োজন জনগণের সম্মিলিত প্রচেষ্টা। সঙ্কট যত গভীরই হোক জনগণ ঐক্যবদ্ধ থাকলে তা উৎড়ানো কোন কঠিন কাজ নয়। সরকার জনগণের দুঃখ লাঘবে সব সময় পাশে আছে। তিনি আরও বলেন,
ঘূর্নিঝড়ের আঘাতে কয়রা উপজেলার ২১টি স্থানে বেড়িবাঁধ ভেঙে যায়। স্থানীয় মানুষের প্রচেষ্টায় বেশিরভাগ স্থানে অস্থায়ি রিংবাঁধ দিয়ে পানি প্রবেশ বন্ধ করা হয়েছে। কয়েকটি স্থানে এখনও নদীর পানি উঠানামা চলছে। এর মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ আকার ধারণ করে কয়রা সদর ইউনিয়নের ঘাটাখালি বাঁধটি।গ্রামবাসি  সতস্ফুর্তভাবে আমাদের আহ্বানে সাদা দিয়ে এগিয়ে এসেছেন। আশা করি দু’এক দিনের মধ্যে বাঁধটি মেরামত করা সম্ভব হবে। তিনি আরও বলেন, কয়রা বাসির স্বপ্ন পূরনে অক্টোবরে  কয়রা উপজেলার টেঁকসই বেঁড়িবাধ  নির্মাণ কাজ শুরু হবে ইনশাল্লাহ ।উল্লেখ্য ঘূর্ণিঝড় আম্পানে কপোতাক্ষ নদের তীরবর্তি পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঘাটাখালি ও হরিণখোলা বেড়িবাঁধ ভেঙে উপজেলা সদরসহ ১৭টি গ্রাম প্লাবিত হয়। পরে গ্রামবাসির প্রচেষ্টায় সেখানে একটি অস্থায়ি রিংবাঁধ দেওয়া হয়। গত শুক্রবার পূর্ণিমার জোয়ারের চাপে ওই রিংবাঁধ ভেঙে আবারো প্লাবিত হয় এলাকা। এরপর সাংসদ বাবু স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের নিয়ে পরিকল্পনা করে পুনরায় বাঁধটি মেরামতের উদ্যোগ নিয়েছেন।

মোংলায় উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের পক্ষ থেকে মাস্ক-স্যানিটাইজার বিতরণ

মোংলায় উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের পক্ষ থেকে  মাস্ক-স্যানিটাইজার বিতরণ




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা
 পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপিথর পক্ষ থেকে ১০ জুন বুধবার সকালে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়।

বুধবার সকাল ১০টায় পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান জসিম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতা ডাঃ জীবিতেষ বিশ্বাসথর কাছে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য মাস্ক এবং স্যানিটাইজার হস্তান্তর করেন। জানাগেছে পৌরসভা এবং ৬ ইউনিয়নে ৭ হাজার মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়। উল্ল্যেখ্য এর আগে বেগম হাবিবুন নাহার এমপিথর পক্ষ থেকে আওয়ামীলীগ নেতা শেখ কামরুজ্জামান জসিমের তত্ত্বাবধানে হাসপাতালে স্বাস্থ্য সুরক্ষা কর্ণার স্থাপন ও পিপিই প্রদান করা হয়।

মোংলার বুড়িরডাঙ্গায় উপমন্ত্রীর হাবিবুন নাহারের পক্ষ থেকে ত্রান বিতরণ

মোংলার বুড়িরডাঙ্গায় উপমন্ত্রীর হাবিবুন নাহারের পক্ষ থেকে  ত্রান বিতরণ




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা    
বাগেরহাট-৩ মোংলা-রামপাল আসনের সংসদ সদস্য পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহারের পক্ষ থেকে ১০ জুন বুধবার সকালে মোংলার বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের বিদ্যারবাহন গ্রামে ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ এবং করোনায় সৃষ্ট পরিস্থিতে দরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। 

বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় খুলনা সিটি কপোর্রেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেকথর উপস্থিতি থেকে উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৩০০ জন দরিদ্র নারী-পুরুষের মধ্যে ত্রান হিসেবে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়। এ সময় মোংলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রাহাত মান্নান, বুড়িরডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান নিখিল রঞ্জনসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অন্যদিকে বুধবার বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা রূপান্তরের পক্ষ থেকে “সাইক্লোন আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের জন্য, জীবন রক্ষাকারী জরুরী সহায়তা কার্যক্রমচ্ অংশ হিসেবে মোংলা উপজেলার চিলা ইউনিয়নের ৫৪টি পরিবার, বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের ৪৬টি পরিবার এবং চাঁদপাই ইউনিয়নের ৩০টি পরিবারের মধ্যে  ত্রাণ সামগ্রী নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়। এয়াড়া ন্যাজারিণ মিশনথর পক্ষ থেকেও ত্রান হিসেবে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়।##

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চাল পাচারে মামলা

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চাল পাচারে মামলা




মো: আ: হামিদ মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

জব্দ করার দুইদিন পর খাদ্য বান্ধব কর্মসুচীর চাল পাচারে মামলা। টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার পার্শ্ববর্তী ধনবাড়ীতে জব্দ হওয়া খাদ্যবান্ধব কর্মসূচী ও ত্রাণের ৭১ বস্তা চাল নিয়ে ধুম্রজালের সৃষ্টি হয়েছেছিল। জব্দ করা ৭১ বস্তা চালের মধ্যে ২৪ বস্তা চাল মধুপুর উপজেলার গোলাবাড়ী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুস ছাত্তারের নিকট থেকে এবং বাকী চাল বিভিন্ন জনের কাছে থেকে কিনেছেন বলে চাল ব্যবসায়ী নূরুল ইসলাম স্বীকার করেছেন।
সোমবার (৮ জুন) ও মঙ্গলবার (৯ জুন) মধুপুর ও ধনবাড়ী উপজেলা প্রশাসনের দফায়-দফায় জিজ্ঞাসাবাদে সরকারী চাল কেনা-বেচার এ তথ্য নিশ্চিত করে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন চাল ব্যবসায়ী নূরুল ইসলাম ও ভাইঘাট বাঘিল রজনীগন্ধা রাইচ প্রসেসিং মিলের মালিক সাদিকুল ইসলাম আমিন।

সাদিকুল ইসলাম আমিন জানান, চাল ব্যবসায়ী নূরুল ইসলাম মধুপুরের গোলাবাড়ী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুস ছাত্তারের নিকট থেকে ২৪ বস্তা এবং বিভিন্ন জনের কাছ থেকে বাকী চাল ক্রয় করে মোট ৭১ বস্তা চাল তার মিলে প্রসেসিং করার জন্য এনে ছিলেন।
চাল ব্যবসায়ী নূরুল ইসলাম জানান, জব্দ করা চাল তার কাছে ছাত্তার মেম্বার বিক্রি করেছেন।

এ ব্যাপারে মঙ্গলবার(৯জুন) রাতে মধুপুর উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক আনিসুর রহমান বাদী হয়ে ধনবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হলেন গোলাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের মাঝিরা গ্রামের আব্দুস সাত্তার এবং ভাইঘাটের চাল ব্যাবসায়ী মো: নূরুল ইসলাম।

মধুপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফা জহুরা  জানান, ৭১ বস্তা চালের মধ্যে ২৪ বস্তা ফেয়ার প্রাইসের।বাকীটা ত্রান সহ অন্যান্য খাতের।ঘটনাস্হল ধনবাড়ী উপজেলাধীন হওয়ায় জব্দকৃত চাল ধনবাড়ী উপজেলা প্রশাসনের জিম্মায় দেয়া হয়। এঘটনায়  ধনবাড়ী থানায় মামলা হয়েছে। একটু জটিলতা থাকায় তদন্তে বেশী সময় লেগেছে। তিনি আরও জানান সরকারের দেয়া এ চাল নিয়ে কেও দুর্নিতি করলে তাকে ছাড় দেয়া হবে না।
উল্লেখ্য, টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচী ও ত্রাণের ৭১ বস্তা সরকারী চাল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে  মধুপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফা জহুরা ধনবাড়ী উপজেলার ভাইঘাট বাঘিল রজনীগন্ধা রাইচ প্রসেসিং মিলে অভিযান চালিয়ে রোববার (০৭ জুন) রাতে জব্দ করেন। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

নবীনগরের নারী মেম্বার পূর্ণিমা বণিক বরখাস্ত, তবে চেয়ারম্যান ও মেম্বার বহাল তবিয়তে

নবীনগরের  নারী মেম্বার পূর্ণিমা বণিক বরখাস্ত, তবে চেয়ারম্যান ও মেম্বার বহাল তবিয়তে





এস.এম অলিউল্লাহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার লাউর ফতেপুর ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর এককালীন ২৫০০ টাকা প্রদানের তালিকায় অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় অবশেষে ওই ইউনিয়নের সংরক্ষিত নারী আসনের মেম্বার পূর্ণিমা রাণী বণিককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।


 তবে একই অভিযোগে  অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ ও স্থানীয় আরেক মেম্বার জামাল মিয়া বরখাস্ত না হওয়ায় অভিযোগ প্রদানকারী আওয়ামী লীগ নেতা তার অভিযোগটি পুনঃতদন্তের দাবি জানিয়েছেন। বিষয়টি মুঠোফোনে চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনারকেও জানানো হয়েছে বলে আজ বুধবার সকালে সাংবাদিকদের কে নিশ্চিত করেছেন আবেদনকারী আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল্লাহ আল মাসুম।


জানা যায়, লাউর ফতেপুর ইউপির চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদের সহযোগিতায় স্থানীয় একাধিক মেম্বার প্রধানমন্ত্রীর সহায়তার ওই তালিকায় প্রকৃত দরিদ্রদের বদলে নিজেদের আত্মীয়-স্বজন ও বিত্তশালীদের নাম অন্তর্ভুক্ত করার অভিযোগ এনে গত ২ জুন জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবদুল্লাহ আল মাসুম। অভিযোগে বলা হয়, ১ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার পূর্ণিমা বণিক ও ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার জামাল মিয়া দরিদ্রদের বাদ দিয়ে  নিজেদের বাবা, মা, ছেলে, মেয়ে পুত্রবধূসহ নিকট আত্মীয় ও স্বজনদের নাম তালিকাভুক্ত করেন। পাশাপাশি চেয়ারম্যান নিজেও সুস্থ ও স্বচ্ছল লোকদেরকে হতদরিদ্র দেখিয়ে প্রতিবন্ধী ভাতাসহ প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তার তালিকায় নাম দেন।


সূত্র জানায়, এরপর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খানের নির্দেশে আবেদনটির তদন্ত করেন নবীনগরের উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা প্রশাসনের তদন্ত রিপোর্টের ভিত্তিতে গতকাল মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে শুধুমাত্র মহিলা মেম্বার (সংরক্ষিত) পূর্ণিমা রাণী বণিককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। এরপরই বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

এ বিষয়ে আবেদনকারী আবদুল্লাহ আল মাসুম বলেন, 'আমার আবেদনে একজন নারী মেম্বারকে বরখাস্ত করা হলেও, সুনির্দিষ্ট আরো বেশি অভিযোগ থাকার পরও চেয়ারম্যান ফারুক ও মেম্বার জামাল বরখাস্ত না হওয়াটা রহস্যজনক। তদন্ত কমিটি ম্যানেজ হয়ে এই অন্যায় কাজটি করেছে। আমি চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার স্যারকে বিষয়টি মুঠোফোনে জানিয়েছি। তিনি আমাকে অভিযোগটির পুনঃতদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন।'


বিষয়টির তদন্ত করা তিন সদস্যের অন্যতম নবীনগরের উপজেলা প্রকল্প ও বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, 'ওই নারী মেম্বার পূর্ণিমা তার ছেলে আর বউকে তালিকাভুক্ত করার বিষয়টিসহ জামাল মেম্বারের বাবা ও নিকট আত্মীয়কে তালিকাভুক্তির বিষয়টিও তদন্তে পাওয়া গেছে। তবে জামাল মেম্বারের বাবা একজন হিন্দু নারীকে বিয়ে করায়, তাকে ত্যায্য করার মানবিক দিকটিও তদন্ত প্রতিবেদনে লেখা হয়েছিল। আর চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা আমরা পাইনি।'

এ বিষয়ে নবীনগরের ইউএনও মোহাম্মদ মাসুম আজ ১০ই জুন বুধবার সকালে  সাংবাদিকের কে বলেন, 'ডিসি স্যারের নির্দেশে বিষয়টির দ্রুত তদন্ত করিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছি। তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই পূর্ণিমা বণিক বরখাস্ত হয়েছেন।'

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক হায়াত-উত-দৌলা খানের সঙ্গে এবাথিকবার কথা বলার চেষ্টা করেও কথা বলা যায়নি।

প্রসঙ্গত, গত ৩ জুন সংবাদ মাধ্যমে  'নবীনগরে প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তার তালিকায় ফের অনিয়মের অভিযোগ' শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।

মাধবপুরে ৮ জনকে মাস্ক না পরায় জরিমানা,

মাধবপুরে ৮ জনকে মাস্ক না পরায় জরিমানা,




লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

 হবিগঞ্জের মাধবপুর বাজারে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে মাস্ক না পরায় ৮ জনকে ৪৫০০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার দুপুরে মাধবপুর পৌর শহরে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারী ভূমি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা আক্তার। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাধবপুরে থানার এসআই আলাউদ্দিন।
জানা যায়, মাস্কের ব্যবহার নিশ্চিত,

 করতে বুধবার (১০-জুন) দুপুরে মাধবপুর উপজেলা প্রশাসন পৌর বাজারে অভিযান চালায়। এ সময় মাস্ক না পরার দায়ে ৮ জনকে ৪৫০০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি মাস্ক না থাকায় অনেক পথচারীর মাঝে মাস্ক

 বিতরণ করে প্রশাসন এ বিষয়ে মাধবপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা আক্তার বলেন, এই অভিযান চলমান থাকবে, মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক হলেও অনেকে তা না পরে বাইরে বের হচ্ছেন।

 মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করতে শহরে, অভিযান চালানো হয়েছিল এ সময় মাস্ক না পরায় ৮জনকে জরিমানা করা হয়েছে।

বয়ড়া ভেন্নাবাড়ি উচ্চবিদ্যালয়ের উদ্যোগে মোহাম্মাদ নাসিমের রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া মাফিল

বয়ড়া ভেন্নাবাড়ি উচ্চবিদ্যালয়ের উদ্যোগে মোহাম্মাদ নাসিমের রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া মাফিল



 মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিমের সংকটাপন্ন অবস্থার উন্নতীত কামনা করে বয়ড়া ভেন্নাবাড়ি উচ্চবিদ্যালয় মাঠে বিশেষ দোয়া কামনা করা হয়েছে। বুধবার বাদ আছর স্কুল মাঠে মহান রাব্বুল আলামিনের নিকট তার রোগমুক্তির জন্য দোয়া করেন স্থানীয় নেতা কর্মিরা। রতনকান্দি ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত ছাইদুল ইসলাম জুরানের সভাপতিত্বে   ,এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সদস্য গোলাম রব্বানী তালুকদার, রতনকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন, জেলা স্বচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি এইচ এম মিল্টন, ইউনিয়ন আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হোসেন, যুবলীগের সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক বুলবুল আহমেদ ভুট্টু, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল ইসলাম আবির, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আঃআলিম খাঁন সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম বাবু সহ ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ডের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ । বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শহিদুল ইসলাম।    
মৌলভী জহুরুল ইসলামসহ অন্যান্যরা দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ বিশে শায়িত হাসপাতালে মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের পর লাইফ সাপোর্টে থাকা নাসিমের দ্বিতীয় দফা করোনাভাইরাস পরীক্ষায় ফল ‘নেগেটিভ’ এসেছে। তার অবস্থা এখনও অপরিবর্তিত রয়েছে।

নওগাঁর আত্রাইয়ে পঞ্চগড় ট্রেনের সাথে বালু ট্রলির ধাক্কা

নওগাঁর আত্রাইয়ে পঞ্চগড় ট্রেনের সাথে বালু ট্রলির ধাক্কা





 মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁ আত্রাইয়ে আহসানগঞ্জ রেল ট্রেশনে ঢাকাগামী পঞ্চগড় ট্রেনটি বালুবাহী ট্রলির সাথে ধাক্কা লেগে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়েছে। 
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়,  বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে আহসানগঞ্জ স্টেশনে অতিক্রম করার সময় স্টেশনে বালুবাহী ট্রলি সাথে ধাক্কা লাগে। এসময় ট্রলিটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। ট্রেনের ভ্যাকম পাইপ ফেটে গেল ট্রেনটি দাঁড়িয়ে যায়। এতে উত্তরঙ্গের সাথে ট্রেন চলাচল বন্ধ আছে। তবে কেউ হতাহত হয়নি।
আহসানগঞ্জ স্টেশন মাষ্টার বলেন, স্টেশনে মেরামতের কাজ চলছে। একটি ট্রলির বালু আনলোড করছিল। এসময় পঞ্চগড় আন্তঃনগর ট্রেনটি অতিক্রম করার সময় ধাক্কা লাগে। বিষয় উর্ধতন কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে। ঈশ্বরদী থেকে  ইঞ্জিন আসলে ট্রেনটি ঢাকা উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে ।

কবি ও লেখক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম এর- কবিতা অমানুষ!

কবি ও লেখক  মোঃ জাহাঙ্গীর আলম এর- কবিতা অমানুষ!




জ্বলছে মানুষ পুড়ছো দেশ 
নিচ্ছো কেড়ে প্রাণ-----
পাপীর পাপে ধ্বংস জগৎ 
নেইকো জাতির মান------
বৃদ্ধা শিশু ধর্ষিতা হয় 
তোমার স্বাধীন দেশে----
সুদে ঘুষে চলছে চুরি  
হিংসা বুকে পোষে----
লাঞ্ছিত আজ মানবতা 
সুশীল গুরুজনে-----
সত্য বাণী স্বাধীন দেশে 
কেবা এখন শুনে------
বীর বাঙালি  হিংস এখন 
শান্ত নাহি হবে----
বলনা তোরা বিবেকবান এক 
মানুষ হবি কবে----

দেশটা আজও হয়নি স্বাধীন-
স্বাধীন স্বদেশ গড়ো-
স্বাধীন  মুখে বললে কথা 
কেন খাঁচায় ভরো--
জোর জুলুম আর লাশের মিছিল নিত্যদিনের খেলা--
সৎপথে কেউ চললে আবার
 করছো তাদের হেলা---
সত্য বাণী শুনাই পাপী 
মিথ্যে নেতার ছলে--
পিছুন থেকে স্বদেশটা আজ 
খাচ্ছে ওঁরা গিলে---
নত শিরে সইবি কত 
আয়রে তরুণ ক্ষেপে-----
বলনা তোরা বিবেকবান এক 
মানুষ হবি কবে----

শক্তি যাদের রাষ্ট্র তাদের 
মিথ্যে মুখের কথা----
লক্ষ শহীদ রক্ত দিলো 
ত্যাগ ছিল কি বৃথা ----
গরীব দুখী মরছে ধুঁকে 
বাড়ছে ধনীর ধন-----
কুলুফ এঁটে দেখছে চেয়ে
 অসৎ গুণীজন----
বিবেক সমাজ পুড়ছে সবার 
ঘুন ধরেছে মনে--
কবে স্বদেশ হবে স্বাধীন 
আল্লাহ তাআ'লা জানে-
প্রতিবাদে আসবে বিনাশ 
উঠবে বিবেক জেগে--
বলনা তোরা বিবেকবান এক 
মানুষ হবি কবে----

চলমান-------!

ঝিনাইদহে আগামী কাল থেকে ২টার মধ্যে দোকানপাট বন্ধ, মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক

ঝিনাইদহে আগামী কাল থেকে ২টার মধ্যে দোকানপাট বন্ধ, মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক






খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 



১০জুন দুপুরে ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্খে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ বিষয়ক এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। 
জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ এর সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই এমপি, শফিকুল আজম খান চঞ্চল এমপি, পুলিশ সুপার মো: হাসানুজ্জামান পিপিএম, ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের ৮৮ পদাতিক ব্রিগেডের ২ ইস্টবেঙ্গলের অধিনায়ক লে.ক. নাসির উদ্দিন আহমেদ, ঝিনাইদহ র‌্যাবের অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভা মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু, জেলা পরিষদের সচিব রেজাই রাফিন সরকার, সিভিল সার্জন ডা: সেলিনা বেগম, সকল উপজেলা চেয়ারম্যান, নির্বাহী অফিসারগণ ও সকল পৌরসভা মেয়র উপস্থিত ছিলেন। 
জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ কমিটির সিদ্ধান্ত ঘোষনা করেন। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার (১১ জুন) থেকে সকল ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান, চায়ের দোকান দুপুর ২ টার মধ্যে বন্ধ করতে হবে। ঔষধ ফার্মেসী ছাড়া কোন দোকান খোলা রাখা যাবে না। ইজিবাইকে ২ জনের বেশি যাত্রী উঠানো যাবে না এবং মাস্ক পরা বাধ্যতামুলক। মাস্ক না পরে বাইরে গেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জেলা বা জরিমানা করা হবে। এছাড়াও গ্রামাঞ্চলের দোকান বা চায়ের দোকান ২ টার পর খোলা পাওয়া গেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বা¯Íবায়নে পুলিশ, র‌্যাব, সেনাবাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করবে।

২০২০ ও ২১ অর্থবছরের বড় ধরণের বিল পাশ হতে যাচ্ছে আগামীকাল ৫,৬৮,০০০ কোটি টাকার বাজেট

২০২০ ও ২১ অর্থবছরের বড় ধরণের বিল পাশ হতে যাচ্ছে আগামীকাল ৫,৬৮,০০০ কোটি টাকার বাজেট




ডেস্ক রিপোর্টঃ
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় অর্থমন্ত্রী আজ
২০২০-২১ অর্থ বছরের জন্য বৃহস্পতিবার (১১ জুন) বিকেল সাড়ে ৩টায় করোনা দুর্যোগের মধ্যেই ৫৬৮০০০ কোটি টাকার আগামী বাজেট ঘোষণা করতে যাচ্ছেন  কুমিল্লার পল্লী মাটির কৃতি সন্তান, বাংলাদেশের অহংকার, মাননীয় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল (লোটাস কামাল) এফ সি এ  এমপি।
আশা করি এই বাজেট দেশের কল্যাণে জাতির কল্যাণে বড় ধরনের ভূমিকা রাখবেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে। 

আত্রাইয়ে ৬ হাজার হেক্টর জমিতে আমন চাষ অনিশ্চিত

আত্রাইয়ে ৬ হাজার হেক্টর জমিতে আমন চাষ অনিশ্চিত




 ফিরোজ হোসাইন
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর আত্রাইয়ে মাঠে মাঠে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ায় প্রায় ৬ হাজার হেক্টর জমিতে আমন চাষ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। 

ফলে কৃষকদের মাঝে দেখা দিয়েছে উদ্বিগনতা। উপজেলার প্রতিটি এলাকার কৃষকদের আমন ধানের বীজতলা পানির নিচে ডুবে যাওয়ায় তারা আমনের চারা উৎপাদন করতে পারছে না।

জানা যায়, উপজেলার শাহাগোলা, কাশিমপুর, ভোঁপাড়া, জামগ্রাম, মনিয়ারী, নওদুলী, পালশা, চৌথলসহ পূর্ব এলাকার মাঠগুলো আমন চাষের জন্য বিখ্যাত। এসব এলাকার কৃষকরা বোরো ধান ঘরে তোলার পর পরই আমনের বীজতলা তৈরীতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। এলাকা জুড়ে চিনি আতপ, জিরাসাইল, পাইজামসহ বিভিন্ন জাতের আমন ধানের আবাদ করে থাকে। কিন্তু এবারে বোরো ধান কাটা শেষ হতে না হতেই অতি বর্ষণ এবং নদীর পানি বৃদ্ধির ফলে প্রতিটি মাঠে বন্যার পানি ঢুকে মাঠে জলাদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে আমন ধানের চাষ নিয়ে কৃষকরা শঙ্কিত হয়ে পড়েছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানা যায়, উপজেলার ৮ ইউনিয়নে প্রায় ৬ হাজার হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষ হয়। এর মধ্যে মনিয়ারী, ভোঁপাড়া ও শাহাগোলা ইউনিয়নে সর্বাধিক পরিমাণ জমিতে আমন চাষ করা হয়। গত বছর আমন চাষের মৌসুমে রেকর্ড পরিমাণ জমিতে চিনি আতপ ধানের চাষ হয়েছিল। এতে করে কৃষকরা ব্যাপক লাভবানও হয়েছিল। এবারে আগাম বন্যার পানি মাঠে চলে আসায় আমনচাষ ব্যহত হতে পারে।

উপজেলার উঁচলকাশিমপুর গ্রামের বেলাল হোসেন বলেন, আমাদের বোরো ধান কেটে শেষ না করতেই মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। মাঠ পানিতে ভরে গেছে, আমন ধানের আবাদ এবারে করা সম্ভব হবে না।

চৌথল গ্রামের কৃষক আলতাফ হোসেন বলেন, আমাদের এলাকার জমিগুলোতে যেমন বোরো চাষ হয়। তেমনি আমন ধানে চাষও ব্যাপক হয়ে থাকে। গতবার আমরা প্রচুর পরিমানে চিনি আতপ ধানের চাষ করেছিলাম। তাতে ফলনও হয়েছিল ভাল। কিন্তু এবারে বীজতলা তৈরি করতেই পারলাম না। কিভাবে আমন চাষ করবো তা নিয়ে হতাশায় রয়েছি।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ কেএম কাউছার হোসেন বলেন, হঠাৎ করে অতি বর্ষণের ফলে মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। নদীর পানি কিছুটা কমলে মাঠের পানিও কমে যাবে। আমরা আশা করছি মাঠে পানি নেমে গেলে কৃষকরা পুরোদমে আমনচাষ করতে পারবে। যেহেতু আমন চাষের মৌসুম এখনো শুরু হয়নি।

পাটকেলঘাটায় চোরাই মোটরসাইকেলসহ গ্রেফতার-১

পাটকেলঘাটায় চোরাই মোটরসাইকেলসহ গ্রেফতার-১




আজহারুল ইসলাম সাদী, সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ
সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, পিপিএম (বার) এর দিক নির্দেশনায় এবং মোঃ হুমায়ুন কবীর, তালা সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, মোঃ হুমায়ুন কবির ও পাটকেলঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী ওয়াহিদ মুর্শেদ এর নেতৃত্বে পাটকেলঘাটা থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে আজ ১০ জুন এসআই, প্রদুৎ গোলদার ও সংগীয় অফিসার, ফোর্স এর সহায়তায় যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার শংকরপুর গ্রামের মৃত্যু ওসমান ধাবক এর ছেলে, মোঃ আশরাফুল ইসলাম ধাবক (৩৮) কে ১ টি বাজাজ ডিসকভার ১০০ সিসি মোটরসাইকেল সহ গ্রেফতার করেন।
জানা গেছে আটককৃত ব্যক্তি একজন পেশাদার মোটরসাইকেল চোর। তাহার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক চুরি মামলা রয়েছে। 

কুয়েতে করোনা ভাইরাসে নতুন করে আক্রান্ত- ৬৮৩, মৃত্যু- ২ জন

কুয়েতে করোনা ভাইরাসে নতুন করে আক্রান্ত- ৬৮৩, মৃত্যু- ২ জন




দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুর কুয়েত প্রতিনিধিঃ

কুয়েতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য মতে, আজ( ১০ জুন)করোনা ভাইরাসে আরো ৬৮৩ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন বলে শনাক্ত করা হয়েছে।
এ পর্যন্ত কুয়েতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৩৮২৩ জনে, চিকিৎসাধীন  ১০২৬০ জন, সুস্থতা লাভ করেছেন ২৩২৮৮ জন ও বর্তমানে সংকটপূর্ণ অবস্থা ১৯৩ জন।

আজ নতুন করে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে।
এনিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ২৭৫ জনের। 

গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত বিভিন্ন দেশের নাগরিক।

ভারতীয় নাগরিক - ১৩০ জন
স্থানীয় নাগরিক- ২৭৪ জন
মিশরীয় নাগরিক - ৫১জন

আজ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বাংলাদেশী আজ নতুন করে আরো ৫৮ জন সহ শনাক্ত মোট ৩৬৭৭ জন''।
বাকিরা অন্যান্য দেশের।

দেশটির  ৫ প্রদেশে আক্রান্তদের সংখ্যা।

ফারওয়ানিয়া - ২৫৭ জন
আহমদি - ১৬০ জন
হাওয়াল্লী - ১০৩ জন
জাহরা - ১১১ জন
রাজধানী শহর - ৫২ জন

এদিকে আবাসিক এলাকায় সর্বোচ্চ আক্রান্ত।

জিলিব আল-সুয়েখ - ৯৯ জন
ফারওয়ানিয়া - ৪২ জন 
খাইতান- ৩০ জন
সাদ আল-আব্দুল্লা- ২৩ জন
আল-রিগাই- ২৬ জন
হাওয়াল্লী- ২৭ জন
এছাড়াও দেশটির তিনটি জায়গায় যথাক্রমে, জওয়ান রেসর্ট,খাইরান রেসর্ট ও আল-কুত বিচ্ হোটেলসহ আরো বেশ কয়েকটি ক্যাম্পে ২৩ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

বর্তমানে কুয়েতে ''জরুরী অবস্থা'' চলছে।
সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করতে নির্দেশ এবং খুব বেশি প্রয়োজন ব্যতীত ঘরের বাইরে বের হওয়া থেকে বিরত থাকতে নিষেধ করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

কুয়েতের সর্বত্রে (৩১ মে থেকে তিন সপ্তাহ) সন্ধ্যা ৬ টা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত ( ১২ ঘণ্টার কারফিউ)
উল্লেখ্য,  মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে কুয়েতের সর্বত্রে চলছে লকডাউন ও কারফিউ।
প্রায় তিন মাস পর ৩১ মে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধীরে ধীরে দেশটি স্বাভাবিক কাজকর্মে ফেরার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

অন্যদিকেঃ- মাহবুলা,জিলিব,ফারওয়ানিয়া, খাইতান ও হাওয়াল্লী এলাকায় টোটাল লকডাউন।
তবে টোটাল লকডাউন এলাকার কিছু সংখ্যক স্ট্রিট ও ব্লককে এর আওতার বাইরে রাখা হয়েছে। 

টোটাল লকডাউন এর আওতার বাইরে নিম্নের ব্লক ও স্ট্রিট গুলো।
ফারওয়ানিয়াঃ- স্ট্রিট নং- ৬০.১২০.৫২০ ও ১২৯।
খাইতানঃ- ব্লক নং- ৪.৬.৭.৮ ও ৯
সূত্র, আরব টাইমস

ঝিকরগাছায় মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদাণ

ঝিকরগাছায় মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা  প্রদাণ




মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত, ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ

আজ বুধবার ঐতিহ্যবাহী  ঝিকরগাছা সরকারি এম এল মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর উদ্যোগে এবং ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে যৌথভাবে গর্ভবতী মায়েদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা ক্যাম্পেইন করা হয়েছে।
ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সহযোগিতায় এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের মেডিক্যাল ইউনিটের ডাক্তাগনের সমন্বয়ে সারাদিন ব্যাপী এই কার্যক্রম চালানো হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুল ইসলাম, ঝিকরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমী মজুমদার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুবনা তাক্ষী  বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট কর্ণেল নেয়ামুল হালিম খাঁন, ডা. ফাতেমা জেরিন খাঁন, মেজর ডাক্তার (গাইনী) শামিমা, ক্যাপটেন ডাক্তার মামুন, ঝিকরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, ঝিকরগাছা সরকারি এম এল মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান আজাদ, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার নাসরিন আখতার সুলতানা, সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার মোকারম, মেডিকেল সহকারী সার্জেন্ট জাফর ইকবল, প্রদিপ, শাহাদৎ, মফিজ, কর্পোরাল সানোয়ার, থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই দেবব্রত দাশ, উপজেলা পরিষদের সিএ ইমদাদুল হক ইমদাদ সহ আরো অনেকে।

মহেশপুরে দত্তনগর বীজ উৎপাদন খামারে টেন্ডার ছাড়ায় আড়াইশো একর জমির খড় বিচালী বিক্রির অভিযোগ

মহেশপুরে দত্তনগর বীজ উৎপাদন খামারে টেন্ডার ছাড়ায়  আড়াইশো একর জমির খড় বিচালী বিক্রির অভিযোগ




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 


 
বৃহত্তম এশিয়া মহাদেশের দ্বিতীয় কৃষি বীজ উৎপাদন দত্তনগর খামারে চলতি বোরো মৌসুমের প্রায় ৩শ একর জমির খড় বিচালী কোন কোটেশন বা টেন্ডার ছাড়াই ১০ ল¶ টাকায় বিক্রি করে ¯সমুদ্বয় টাকা আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে বিএডিসির মথুরা খামারের ডিডি মুজিবর রহমানের বিরুদ্ধে।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, বিএডিসির চেয়ারম্যান কর্তৃক অনুমতি ছাড়াই ফার্মের কোন বীজ বা খড় বিচালী কোন রকম কারো নিকট বিক্রি করার নিয়ম নেই। কিন্তু অসৎ পথে টাকা আত্মসাৎ করার উদ্দ্যোশে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার দত্তনগর মথুরা খামারের উপ-পরিচালক (ডিডি) মুজিবর রহমান কাউকে কিছু না জানিয়ে গোপনে কোন কোটেশন বা টেন্ডার ছাড়াই ফার্মের আওতাধীন প্রায় ৩শ একর জমির খড় বিচালী অবৈধভাবে ১০/১২ ল¶ টাকায় বিক্রি করে সম্পূর্ণ আত্মসাত করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। 
এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ ও গণ-মাধ্যমে ফাঁস হলে ডিডি মুজিবর রহমান ব্যাপক দৌড় ঝাপ শুরু করে। বিএডিসির নিয়মনীতি তোয়াক্কা না করে উক্ত ডিডি শাক দিয়ে মাছ ঢাকার উদ্দ্যেশে কথিত গন-মাধ্যম কর্মী ও এলাকার রাজনৈতিক ব্যক্তিদের ম্যানেজ করে গত ৮জুন ফার্মে এক ভুড়িভোজের আয়োজন করে। 
দত্তনগর বীজ উৎপাদন খামারের আওতাধীন প্রায় ৩ হাজার একর জমির উপর মোট ৫টি বীজ উৎপাদন খামার ও একটি হিমাগার গোডাউন রয়েছে। কর্পোরেশন (বিএডিসির)এর  মাধ্যমে এখানে ধান, ভুট্টা, আলু, গম, শাক-বীজ সহ শস্যবীজ উৎপাদন করা হয়ে থাকে। এছাড়া অফিস, বাসভবন, বাগান, পুকুর ও গরুর খামার সহ বিশাল অব কাঠামো রয়েছে। তবে এখানে এক যুগ্ন পরিচালক সহ ৫ খামারে ৫ উপ-পরিচালক ও একজন হিমাগার উপ-পরিচালক ও ম্যানেজার সহ বিভিন্ন পদবীর কর্মকর্তা কর্মচারী  থাকার কথা। 
উল্লেখ্য, গত ২০১৯ ইং সালের সেপ্টেম্বর মাসে সাড়ে ৩ কোটি টাকার ধান বীজ আত্মসাতের দায়ে ৫ খামারের ৫ উপ-পরিচালক (ডিডি) সহ বেশ কিছু কর্মকর্তা ও কর্মচারী সাময়ীক বরখাস্ত  হয়। বরখাস্তকৃত স্থানে মথুরা ফার্মে ডিডি মুজিবর রহমান যোগদান করে তার রেশ যেতে না যেতেই তিনি টেন্ডার বিহীন প্রায় ৩শ একর জমির খড় বিচালী বিক্রি করলেন। 
এবিষয়ে মথুরা ফার্মের ডিডি মুজিবর রহমানের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ধান সংগ্রহ করার পর খড়-বিচালী মাঠে পড়ে থাকে এগুলি আমরা বিক্রি করি না। সাধারন মানুষ এগুলো একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছে এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমাদের সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য এগুলো বলা হচ্ছে। বর্তমানে যুগ্ন পরিচালকের দায়িত্বে কেউ না থাকায় হেড অফিস নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। বিএডিসির চেয়ারম্যান সায়েদুল ইসলামের সাথে অফিস নাম্বারে যোগাযোগ করেও পাওয়া যায়নি। 
বিএডিসির মহা ব্যবস্থাপক(তদন্ত) মেরিনা শারমিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে মহা ব্যবস্থাপক (বীজ) এসএম আলতাফ হোসেনের সাথে কথা বলার জন্য। কিন্তু তার সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করেও পাওয়া যায়নি। এলাকাবাসী এ বিষয়ে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়েছে।

মিরসরাইয়ে ৫৪৭ মসজিদে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান

মিরসরাইয়ে ৫৪৭ মসজিদে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান




মিরসরাই প্রতিনিধি
মিরসরাই উপজেলার ১৬ ইউনিয়ন ও ২ পৌরসভায় অবস্থিত ৫৪৭ টি মসজিদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুদান দেয়া শুরু হয়েছে। প্রতিটি মসজিদে ৫ হাজার টাকা করে অনুদান দেয়া হচ্ছে। বুধবার (১০ জুন) উপজেলার করেরহাট ইউনিয়নের ৪২টি মসজিদে অনুদান প্রদানের মাধ্যমে কার্যক্রম শুরু হয়। করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন ও পরিচালনা কমিটির সভাপতির হাতে নগদ অনুদান তুলে দেন করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এনায়েত হোসেন নয়ন। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইসলামী ফাউন্ডশেন মিরসরাই উপজেলার ফিল্ড সুপারভাইজার নুরুল হক শিকদার, করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য শহীদ উল্লাহ, আজাদ উদ্দিন, বেলাল উদ্দিনসহ সদস্যবৃন্দ।


করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে আমার ইউনিয়নের ৪২টি মসজিদের জন্য ৫ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করা হয়েছে। আমি সকলের কাছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মিরসরাই এর অভিভাবক প্রিয় নেতা সাবেক সফল মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন ও মিরসরাই'র আগামীর কর্ণধার মাহবুব রহমান রুহেল ভাইয়ের জন্য দোয়া কামনা করছি।

মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল আমিন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে ৫৪৭ মসজিদের জন্য ৫ হাজার টাকা করে অনুদান পাঠানো হয়েছে। বুধবার থেকে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের মাধ্যমে বিতরণ শুরু হয়েছে। যদিও মিরসরাই উপজেলায় প্রায় এক হাজারের বেশি মসজিদ রয়েছে। ইসলামি ফাউন্ডেশন তালিকা করতে অনেক মসজিদ বাদ পড়েছে। আমরা পুনরায় তালিকা করে পাঠিয়েছি। আশা করছি বাকি মসজিদগুলোর জন্যও অনুদান আসবে।

শার্শায় ইছামতি নদী থেকে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ

শার্শায় ইছামতি নদী থেকে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে  পুলিশ




তুহিন হোসেন, বেনাপোল প্রতিনিধি:
যশোরের শার্শা পাঁচভুলোট সীমান্ত সংলগ্ন ইছামতি নদী থেকে শরীফুল (২৫) নামে এক বাংলাদেশির লাশ উদ্ধার করেছে শার্শা থানা পুলিশ।

বুধবার(১০ই জুন)দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।নিহত ব্যক্তি হলেন,শার্শা থানাধীন রাজগঞ্জ গ্রামের মৃত ইছাহক আলীর ছেলে শরীফুল (২৫)।

পাছ ভূলাট গ্রামের নিসার আলী জানান,বুধবার বেলা ১১ টার দিকে স্থানীয় লোকজন নদীতে গেলে নিহতের লাশ দেখে বিজিবিকে খবর দেয়। ঘটনাস্থলে বিজিবি গিয়ে তার লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয়।

স্থানীয়রা জানান,পাছ ভূলাট গ্রামের তবি মেম্বার সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ করেন। তিনি বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন লোকজন দিয়ে ভারত থেকে গরু ও বিভিন্ন মাদকদ্রব্য বাংলাদেশের প্রবেশ করান। নিহত শরিফুল তার লোক বলে সীমান্তের একাধিক সূত্র জানান।

নিহতের শ্বশুর আলী হোসেন ও চাচা ইউনুস আলী বলেন,শরীফুল একজন গরু ব্যবসায়ী। গত সোমবার সে গরু কিনতে ভারতে যান। এরপর গতকাল রাতে ফেরার পথে বিএসএফ সদস্যরা তাকে গুলি করে হত্যা করে। এরপর লাশ ইছামতি নদীতে ভাসিয়ে দেয়।     

শার্শা থানার (ওসি)বদরুল আলম জানান,পুলিশ ও বিজিবির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশের শরীরে গুলির চিহ্ন রয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য যশোর মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মোহনগঞ্জে মারুফা হত্যার দ্রুত পোস্টমর্টেম রিপোট ও বিচারের দাবিতে প্রতীকী অনশন

মোহনগঞ্জে মারুফা হত্যার দ্রুত পোস্টমর্টেম রিপোট ও বিচারের দাবিতে প্রতীকী অনশন





আজহারুল ইসলাম মোহনগঞ্জ (নেত্রকোনা): নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে গৃহকর্মী মারুফা হত্যার প্রতিবাদ অব্যাহত রেখেছে স্থানীয় বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন। 
এ লক্ষ্যে মোহনগঞ্জ উপজেলার নারী নির্যানতন প্রতিরোধ কমিটির নেতৃত্বে ২০টির অধিক সংগঠন মিলিত হয়ে 'মারুফা মঞ্চ' গঠন করে প্রতীকী অনশনের মাধ্যমে এ হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচার ও দ্রুত পোস্টমর্টেম রিপোট দেওয়ার দাবি জানান।

বুধবার (‌১০ জুন) সকাল ১১ টা থেকে মোহনগঞ্জ পৌরশহরের শহীদ মিনারে বসে তারা এ প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করে। 
এ সময় ঐতিহ্যবাহী পাইলটিয়ান ব্যাচ ও সামাজিক স্চ্ছোনেবী সংগঠন শিশু ছায়ার সদস্যরা ব্যনার সহ এতে যোগ দিয়ে একাত্মতা জানায়। 
তাদের সঙ্গে যোগ দেন নেত্রকোনাস্থ মোহনগঞ্জ সমিতির নেতৃবৃন্দও। 

এ সময় শহীদ মিনারের এক কোণে বসে চোখের জল ফেলছিলেন হত্যার শিকার মারুফার মা আকলিমা আক্তার।  

বক্তারা বলেন, ছবিতে দেখা মারুফার গায়ের জখমের চিহ্ন আর তার মায়ের বক্তব্য অনুয়ায়ী এটি একটি ধর্ষণ ও নিমর্ম হত্যাকাণ্ড।
এ ঘটনার সঠিক বিচার না হলে, বিচার হীনতার সংস্কৃতি মাথা চাড়া দিয়ে উঠবে। আমাদে সন্তানদের ভবিষ্যত অনিরাপদ হয়ে যাবে। 
অপরাধী আইনের আওতায় না আসা পর্যন্ত এ আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন তারা।
এসময় দ্রুত ময়না তদন্তের রিপার্ট প্রদান করে অপরাধীকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান তারা। 

জানা গেছে,  গত ৯ মে বারহাট্টার সিংধা ইউপি চেয়ারম্যান কাঞ্চনের মোহনগঞ্জ বাসায় ১৪ বছর বয়সী গৃহকর্মী মারুফা আত্মহত্যা করেছে বলে চেয়ারম্যান নিজেই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। 
পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
পরবর্তীতে ময়নাতদন্তের পর নানার বাড়ি কলমাকান্দায় দাফন করে ১১ মে ৯৯৯ এ কল করে সহায়তা চাইলে পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুনসীর হস্তক্ষেপে মোহনগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের হয়। ওইদিন রাতেই চেয়ারম্যানকে পুলিশ আটক করে ১২ মে আদালতে পাঠায়। পরবর্তীতে ১৪ মে আবার জামিন নিয়ে বেরিয়ে যান চেয়ারম্যান।

আজকের অনশন আন্দোলনে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আকিকুন্নেছা খানম বিউটি, সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল ইসলাম খোকন, নাগরিক উন্নয়নের আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা শামছুল হক মাহবুব, মানবকি মোহনগঞ্জের সভাপতি কবি রইস মনরম, সাধারণ পাঠাগারের সেক্রেটারি মাহবুবুর রহমান নান্টু, চয়নিকা মহিলা পাঠাগাররের লাইলি আরজুমান, উদিচি শিল্পীগোষ্ঠী তাহমিনা ছাত্তার, নেত্রকোনাস্থ মোহনগঞ্জ সমিতির আহ্বায়ক মো. ইকবাল হোসেন, সাবেক পাইলটিয়ান ব্যাচ, শিশু ছায়াসহ ২০ টির অধিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এতে উপস্থিত ছিলেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে এক যুবতীর মৃত্যু হয়েছে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে এক যুবতীর মৃত্যু হয়েছে




এস.এম অলিউল্লাহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

 বুধবার সকাল ৯টার দিকে নবীনগর পৌর এলাকার মাঝিকাড়া গ্রামে নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রাণ হারান তাহসিন আক্তার জনি নামে ওই যুবতী।
জানাযায়, নবীনগর পৌর এলাকার মাঝিকাড়া গ্রামের পরিবহন শ্রমিক জসিম উদ্দিনের মেয়ে তাহসিন আক্তার জনি(৩২) সিলেটে কৃষি বিপণন অধিদপ্তর অফিসে কর্মরত ছিলো। সে পরিবারে চার বোনের মধ্যে সবার বড় এবং সংসারেও একমাত্র উপার্জনকারী ছিলেন। গত বৃহস্পতিবার সিলেট থেকে বাড়িতে আসার পর ঠান্ডা,কাশি,জ্বরে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে যায়, পরে নিজ বাড়িতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সকাল ৯টার দিকে করোনা ভাইরাসের বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে।

খবর পেয়ে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একটি মেডিকেল টিম তার বাড়িতে গিয়ে তার শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছেন। নিশ্চিত করেছেন নবীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত ইউএইচএ ডা. হাবিবুর রহমান
নবীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম বলেন,করোনা রোগীকে যেভাবে দাফন করা হয় সেভাবেই মাওলানা মেহেদীর নেতৃত্বে জানাজা শেষে নবীনগর পৌর এলাকার আলীয়াবাদ কবরস্থানে ওই যুবতীর লাশ দাফন করা হয়।
উল্লেখ্য করোনা ভাইরাস আক্রান্ত কিংবা উপসর্গ নিয়ে নবীনগর উপজেলার মধ্যে ইতিমধ্যে ৩ জন পুরুষ ৩ জন মহিলাসহ মোট ৬জন মৃত্যু বরণ করেছেন।

ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুরে নতুন করে আরও ১ জন করোনা আক্রান্ত

ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুরে নতুন করে আরও ১ জন করোনা আক্রান্ত






খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 



ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে আরো ১ জন  করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। ১০ শে জুন (বুধবার ) সকালে ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন ডাঃ সেলিনা বেগমের বরাদ দিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুর রশিদ।

জানান, কোটচাঁদপুর পৌর শহরের টি এন্ড টি পাড়ার বাসিন্দা (৫০) বছরের এক মহিলা। তার নমুনা সংগ্রহ করে কুষ্টিয়া ল্যাবে পাঠানো হয়েছিল।

আজ ১০ শে জুন (বুধবার) সকালে ওই ব্যক্তির শরীরে করোনা পজেটিভের রিপোর্ট পায়।

ডাঃ রশিদ জানান, বর্তমানে আক্রান্ত রোগী হোম আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন আছেন। স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ওই ব্যক্তির বাড়ি লক-ডাউন করা হয়েছে।

পেছাচ্ছে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা, অনিশ্চিত পিইসি-জেএসসি!

পেছাচ্ছে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা, অনিশ্চিত পিইসি-জেএসসি!






মোঃ হাসান রিফাত, শিক্ষা ডেস্কঃ
করোনা দুর্যোগে স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় সিলেবাস সংক্ষিপ্ত করে ডিসেম্বরের মধ্যে বার্ষিক পরীক্ষা শেষ করার প্রস্তাব রয়েছে। এছাড়া শিক্ষাবর্ষ দুই মাস বাড়িয়ে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত করার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। তবে প্রথমটির পক্ষে শীর্ষপর্যায়ের বেশির ভাগ কর্মকর্তা।

এদিকে করোনার কারণে বেশি ক্ষতির মুখে পাঁচটি পাবলিক পরীক্ষা। নভেম্বরের নির্ধারিত পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষার সঙ্গে চলতি বছরের এইচএসসি ছাড়াও আগামী বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা এ তালিকায় রয়েছে। এর মধ্যে পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে ডিসেম্বরে নেয়ার চিন্তা চলছে।

আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার ১৫ দিন পর হবে এইচএসসি পরীক্ষা। এছাড়া আর আগামী বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা পেছানোর চিন্তা চলছে। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, করোনা দুর্যোগে প্রায় তিন মাস ধরে বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। আগামী দু’মাসেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সচল হওয়ার সম্ভাবনা নেই। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া নিয়ে চরম উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, ছুটিতে ক্ষয়ক্ষতি পোষাতে একাধিক বিকল্প আছে। সিলেবাস সংক্ষিপ্ত করার ক্ষেত্রে অষ্টম শ্রেণির জন্য ততটা নয়। কেননা এর নবম শ্রেণির সঙ্গে সেতুবন্ধ আছে। এ ক্ষেত্রে সিলেবাস শেষ করে প্রয়োজনে ডিসেম্বরে পরীক্ষা নিতে হবে। পরীক্ষা বাতিলের সুযোগ কম। আর ক্ষতি পোষাতে কমপক্ষে দুই-তিন বছরের পরিকল্পনা নেওয়া প্রয়োজন। জেএসসি, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা পেছানো প্রয়োজন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং শিক্ষা বিভাগ সূত্র জাানায়, জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) থেকে শিক্ষাবর্ষ আরওদু’মাস বাড়িয়ে সিলেবাস শেষ করে তারপর বার্ষিক পরীক্ষা নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। সে অনুযায়ী ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পাঠদান করতে বলা হয়েছে। তবে বেশির কর্মকর্তা প্রস্তাবটিকে অবিবেচনাপ্রসূত বলে মনে করছেন। কেননা এমনিতে ‘ট্রমা’র মধ্যে থাকা শিক্ষার্থীদের জন্য তা বড় ধরনের আঘাত হতে পারে। তাই পরীক্ষার ব্যবস্থা করার পক্ষে মতামত দিয়েছেন তারা।

জানা গেছে, বর্তমান ছুটিতে দশম শ্রেণির প্রি-টেস্ট পরীক্ষা হয়নি। অক্টোবরে নির্ধারিত টেস্ট পরীক্ষাও অনিশ্চয়তায়। একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা দ্বাদশে উঠতে পারেনি। অথচ তারা আগামী বছর এইচএসসি পরীক্ষার্থী। ফলে সবকিছু তালগোল পেকে আছে। নভেম্বরে নির্ধারিত পিইসি পরীক্ষার্থীদের লেখাপড়াও বন্ধ।

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী বলেন, পিইসি পরীক্ষা বাতিল করতে আমরা বরাবরই বলে আসছি। সমীক্ষায়ও আমরা তেমন মতামত পেয়েছি।

আর শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন, একাত্তর সালে আমাদের লেখাপড়া বন্ধ ছিল। তখন যেভাবেএগিয়ে নেয়া হয়েছে এবারও সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগানো যায়। পিইসি-জেএসসি দুটি পরীক্ষাই দু’বছরের জন্য বাতিল করা দরকার। শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে তিন বছরের পরিকল্পনা নেয়া প্রয়োজন। পাশাপাশি আগামী বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষাও পেছানোর প্রয়োজন হতে পারে।

কিশোরগঞ্জে মামা- ভাগ্নে সহ করোনায় আক্রান্ত - ৩!

কিশোরগঞ্জে মামা- ভাগ্নে সহ করোনায় আক্রান্ত - ৩!







মো:লাতিফুল আজম
কিশোরগঞ্জ  নিলফামারী প্রতিনিধি :
মামা-ভাগ্নেসহ নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় নতুন করে আরও ৩ জন করোনা পজেটিভ রোগী শনাক্ত। আজ মঙ্গলবার রাতে এদের ফলাফল এসেছে বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের উত্তর দুরাকুটি গ্রামের মৃত ইসমাইলের পুত্র আনিছার ও তার ভাগ্না একই গ্রামের বাবুল হোসেন মেম্বারের ছেলে শরিয়তের করোনা ভাইরাসের উপসর্গ দেখা দেয়। এদিকে কিশোরগঞ্জ সদর ইউপির মুশা গ্রামের আব্দুলের পুত্র হেলালেরও করেনা ভাইরাসের উপসর্গ থাকায় তাদের নমুনা সংগ্রহ করে দিনাজপুর পিসিআর ল্যাবে পাঠালে আজ মঙ্গলবার রাতে তাদের করোনা পজেটিভ ফলাফল আসে। মামা আনিছার নারায়নগঞ্জ থেকে ফেরত ও মামার সংস্পর্শ থেকে ভাগ্নার করোনা পজেটিভ হতে পারে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ধারনা করছে। এদিকে হেলাল ঢাকায় থাকতো বলে জানা গেছে।

দিনাজপুরের বড় ময়দানের লিচু বাজার মনিটরিং করছে সেনাবাহিনী

দিনাজপুরের বড় ময়দানের লিচু বাজার মনিটরিং করছে সেনাবাহিনী




 দিনাজপুর প্রতিনিধিঃকরোনা পরিস্থিতিতে দিনাজপুরের দুগ্ধ খামার, টমেটো বাজার এবং লিচু বাজারের বেচাকেনার সমস্যা মোকাবেলায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ফোর হর্সের সদস্যরা ধারাবাহিকভাবে কাজ করে চলেছে। 
জেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর যৌথ তদারকিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে তারা সবরকম পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিয়ে দেশের লিচুর  সবচেয়ে বড় বাজার বসিয়েছে দিনাজপুরের গোর-ই-শহীদ বড়মাঠে। এতে একদিকে যেমন বজায় থাকছে সামাজিক দূরত্ব অন্যদিকে সুবিধামত পরিসরে বিকিকিনি চলছে।
দিনাজপুরের বিভিন্ন এলাকার বাগানে  উৎপাদিত কোটি কোটি টাকা মুল্যের লিচু সুষ্ঠ বিক্রয় ব্যবস্থাপনা ও দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতে সরবরাহে কোন বিঘ্ন না ঘটে সেজন্য প্রশাসনকে সহযোগিতা করছে সেনাবাহিনী।
আজ সেনাবাহিনীর ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের ফোর হর্স এর সদস্যরা লিচু বাজারে এসে ব্যবসায়ী-লিচু চাষীদের সাথে কথা বলেন ও খোজ খবর নেন, তাদের সুবিধা অসুবিধার কথা শোনেন ও প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করেছেন। 
লিচু বাজারে আগত দেশের বিভিন্ন স্থানের ব্যবসায়ীরা জানান, সেনাবাহিনীর উপস্থিতিতে স্বস্তি ফিরেছে লিচু বাজারে। নেই কোন চাঁদাবাজি, রমরমা ভাব এখন লিচুর বাজারে।
তারা বলেন, আমরা ব্যবসায়ীদের স্বাস্থ্যবীধি মেনে ব্যবসা পরিচারণা করার বিষয়ে ধারনা দিচ্ছি। শুধু লিচু নয় অন্যান্য ফসলের যাতে সুষ্ঠ ব্যবস্থাপনা হয় সেদিকে নজর রাখছি। এছাড়া আমাদের নিজেদের চাহিদামত লিচু আমরা সরাসরি বাগান মালিকদের কাছ থেকে ন্যায্য দামে কিনছি।
সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন মোঃ ইসতিয়াজ আরাফাত জানান,দিনাজপুরের লিচু বাজারের বেচাকেনার সমস্যা মোকাবেলায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ফোর হর্সের সদস্যরা অবিরাম কাজ করে চলেছে। জেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর যৌথ তদারকিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে তারা সবরকম পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিয়ে দেশের লিচুর  সবচেয়ে বড় বাজার বসিয়েছে দিনাজপুরের গোর-ই-শহীদ বড়মাঠে। এর আগেও দুগ্ধ খামার এবং টমেটো বাজারের সামাজিক দুরুত্ব বজায় রেখে ক্রয় বিক্রয় সমস্যা সমাধানে কাজ করেছেন। কৃষকরা যাতে টমেটো ও দুধের দাম পায় সেজন্য বাহিরের ব্যবসায়ী ক্রেতাদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থাসহ স্থানীয় লোকজনের সচেতন করতে কাজ করেছেন।

চট্টগ্রামের ইপিজেড এলাকায় চাকরীর প্রলোভনে মেয়েদের দেহ ব্যবসায় বাধ্য করে প্রতারক হারুন!

চট্টগ্রামের ইপিজেড এলাকায় চাকরীর প্রলোভনে মেয়েদের দেহ ব্যবসায় বাধ্য করে প্রতারক হারুন!





মোঃহাসানরিফাত । 
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের ইপিজেড কলসী দিঘী এলাকায় চাকরীর প্রলোভনে মেয়েদের দেহ ব্যবসায় বাধ্য করার অভিযোগ উঠেছে হারুন নামের এক প্রতারকের বিরুদ্ধে। গত ৮ই জুন সকালে পিরোজপুরের বিথী আক্তার নামের এক ১৪ বছরের কিশোরী পতিতা সম্রাজ্ঞী সালমার ঘর থেকে পালিয়ে এসে ধুমপাড়া এলাকায় সংবাদকর্মী সহ পথচারীদের মাঝে অশ্রুসিক্ত নয়নে এ অভিযোগ তুলে ধরেন। সে এও বলতে থাকেন যে আমি সালমার ঘর থেকে পালিয়ে

এসেছি এটা যাদি পতিতা সম্রাজ্ঞী সালমা ও প্রতারক হারুন জানতে পারে তবে আমাকে জানে মেরে ফেলবে। যার লোমহর্ষক বিবরণের প্রমাণ থেকে যায় সাংবাদিকদের ক্যামেরায়। বিথীর কথায় সে সহ আরো অনেক মেয়ে প্রতারক হারুনের ফাদে পড়ে সর্বশ্য হারিয়েছে তার প্রমাণ মেলে। পেটের তাড়নায় ক্ষুধা নিবারণে গোটা দেশের অসহায় হাজারও মানুষ যখন কর্ম খোজে অত্র এলাকায় অবস্থান। ঠিক তখনি তাদের অসহায়ত্বর সুযোগে

চাকরীর প্রলোভনে মিষ্টি কথায় ভুলিয়ে কলসী দিঘী আজিজিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন রেলবীটে অবস্থিত মোঃ ফারুক মিয়ার টিনশেড ভাড়া নিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ চালানো পতিতা সম্রাজ্ঞী সালমার নিকট মোটা টাকায় বিক্রি করে দেয় প্রতারক হারুন সহ তার সাঙ্গোপাঙ্গোরা। আর নিমিষেই শেষে হয়ে যায় মেয়েটির আগামীর সমস্ত আশা আকাঙ্খা। সালমা টাকায় কেনা মেয়েদের ঘরে তালাবদ্ধকরে রেখে বিভিন্ন ভয়ভীতি

দেখিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্যকরে। দেশের প্রশাসন যেখানে কঠোর অবস্থানে সেখানে সালমার মতো পতিতা সম্রাজ্ঞী ও হারুনের মতো প্রতারক দালাল তারা কিভাবে প্রশাসনের নাকের ডগায় অবৈধ কর্মকান্ড চালাচ্ছে সেটা ভেবে ব্যকুল এলাকার জনসাধারণ। এ বিষয়ে উক্ত ইপিজেড থানার অফিসার ইনচার্জ মীর নুরুল হুদা সাহেবের নিকট মুঠোফোনে জানতে চাই তিনি বলেন, এটা আমার নলেজে নাই, তবে আপনি যেহেতু বললেন, আমি

বিষয়টি দেখবো। পরে এ বিষয়ে প্রতারক হারুনের কাছে জানতে চাইলে হারুন সাংবাদিক দেখে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করতে থাকে এবং তারে সাথে প্রশাসনিক মহলের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তার সার্বক্ষনিক যোগাযোগ আছে বলে হুমকি প্রদান করে। তার এ খুটির জোর কোথায় জানতে চায় এলাকাবাসী। এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত আসছে আগামী সংখ্যা।

নাটোরের বড়াইগ্রামে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে সাইকেল বিতরণ

নাটোরের বড়াইগ্রামে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে সাইকেল বিতরণ





রাজশাহী ব্যুরোঃ
নাটোরের বড়াইগ্রামে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জীবন মান /উন্নয়ন ও শিক্ষায় সহায়তা স্বরুপ মাধ্যমিক পর্যায়ের ৩০ জন ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে বাই-সাইকেল বিতরণ করা হয়েছে। 

বুধবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপি প্রধান অতিথি হিসাবে এসব সাইকেল বিতরণ করেন।

 ইউএনও আনোয়ার পারভেজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপজেলা চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী, বনপাড়া পৌর মেয়র অধ্যাপক কেএম জাকির হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস মিয়াজী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুরাইয়া আক্তার কলি,  ও জাতীয় আদিবাসী পরিষদের উপজেলা সভাপতি যাদু কুমার দাস উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে বাস্তবায়নাধীন ‘বিশেষ এলাকার জন্য উন্নয়ন সহায়তা (পার্বত্য চট্টগ্রাম ব্যতীত)’ শীর্ষক কর্মসূচীর আওতায় ২০১৯-২০ অর্থ বছরে উপজেলার ৩০ জন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে এসব বাইসাইকেল বিতরণ করা হয়।

নাটোর বড়াইগ্রামে পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু

নাটোর বড়াইগ্রামে পানিতে ডুবে  এক শিশুর মৃত্যু




 
রাজশাহী ব্যুরো
 নাটোরে বড়াইগ্রাম উপজেলার নাজিরপুর এলাকায় বাড়ীর পাশে পুকুরে জিহাদ(৮) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকালের দিকে আত্মীয় স্বজনেরা এসে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন। মৃত জিহাদ উপজেলার জোনাইল ইউনিয়নের নাজিরপুর গ্রামের আলমাস হোসেনের ছেলে। পারিবারিক ওস্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে জিহাদ তার বন্ধুদের সাথে নিকট পুকুরে গোসল করতে যায়।গোসল এক পর্যায়ে জিহাদ অথৈ পানিতে তলিয়ে যায়।বন্ধুরা অনেক খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে জিহাদের বাড়িতে খবর দেয়।। খবর পেয়ে আত্মীয়  স্বজনেরা এসে মৃত্যু অবস্থায় উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলে সংস্কার কাজের ৭০ লাখ টাকার টেন্ডারে অনিয়মের অভিযোগ

নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলে সংস্কার কাজের ৭০ লাখ টাকার টেন্ডারে অনিয়মের অভিযোগ




রাজশাহী ব্যুরো
উত্তরবঙ্গের বৃহৎ শিল্প নাটোরের নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলের কয়েকটি রাস্তা ও পুরাতন ভবনের সংস্কারের জন্য বরাদ্দকৃত ৭০ লাখ টাকার টেন্ডারে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। শর্তানুযায়ী দরপত্র গ্রহণের পর লটারি না করে স্থানীয় সংসদ সদস্যের নিজস্ব লোকদের মধ্যে কাজগুলি ভাগবাটোয়ারা করে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন কয়েকজন ঠিকাদার।

স্থানীয় সূত্র ও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঠিকাদারদের মাধ্যমে জানা যায়, চিনিকলের কয়েকটি রাস্তা ও পুরাতন ভবন সংস্কারের জন্য ৭০ লাখ টাকা বরাদ্দ হয়। সংস্কার কাজ সম্পন্নের জন্য দরপত্র আহবান করা হয়। কয়েকটি ঠিকাদার গ্রুপ দরপত্রে অংশ নেন। শর্ত অনুযায়ী দরপত্রে অংশ নেয়া ঠিকাদারদের উপস্থিতিতে লটারি করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। পছন্দমত ঠিকাদারদের ডেকে গোপনে সংস্কার কাজগুলি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

ক্ষোভ প্রকাশ করে বঞ্চিত কয়েকজন ঠিকাদাররা বলেন, সামান্য সংস্কার কাজেও স্থানীয় সাংসদ ও তার লোকরা মিলের এমডি ও প্রকৌশলীর যোগসাজসে গোপনে সংস্কার কাজের বরাদ্দ নিয়েছে। যা আমাদের চরম হতাশ করেছে। স্থানীয় সাংসদ মুখে বলেন, তিনি দুর্নীতি-টেন্ডারবাজি করেন না।  অথচ তার লোকদের জন্য সুপারিশ সহ আশ্রয়-প্রশ্যয় দেন।

মির্জা খোকন ও আবুল কাশেমসহ কয়েকজন ঠিকাদার অভিযোগ করেছেন যে, একই দরে তারা দরপত্রের ৭টি গ্রুপেই অংশ নেন। শর্তানুযায়ী লটারির কথা থাকলেও গোপনে কাজগুলি ভাগবাটোয়ারা করা হয়েছে স্থানীয় এমপির নির্দেশে। এই চিনি কলে সম্প্রতি অনিয়ম দুর্নীতির আখড়ায় পরিনত হয়েছে। তিনি পুনরায় টেন্ডার আহবানের দাবী জানান।

চিনিকলের প্রকৌশলী তারিকুল ইসলাম বলেন, বিধি ও শর্ত অনুযায়ী দরপত্র আহবান ও দাখিল হয়। কোন অনিয়ম করা হয়নি। চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারী ও ১ লা ফেব্রুয়ারী দু’টি পত্রিকায় চিনিকলের সেবা খাতের রাস্তা ও জীর্ণ ভবন উন্নয়নের ৭টি গ্রুপের দরপত্র আহ্বান করে বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। টেন্ডার দাখিলের দিন ধার্য ছিল ২৫ ফেব্রুয়ারী। প্রায় ৭০ লাখ টাকা বরাদ্দের এই কাজগুলি একই দরে প্রায় ২১ জন ঠিকাদার দরপত্র দাখিল করেন। ফলে লটারির মাধ্যমে ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়। প্রায় ১৫ জন ঠিকাদারের উপস্থিতিতে লটারি অনুষ্ঠিত হয়েছে। অন্যরা লটারি করার সময় আসতে না পারায় টেলিফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করছিলেন।

চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল কাদের বলেন, ঠিকাদার নিয়োগসহ কার্যাদেশ প্রদানে কোন ধরনের অনিয়ম করা হয়নি। সবার উপস্থিতিতে লটারি করা হয়েছে। অন্তত ১৫ জন ঠিকাদার উপস্থিত ছিলেন। যারা কাজ পাননি তাদের দু’একজন হয়ত আবেগের বশবর্তী হয়ে এ ধরনের অভিযোগ করছেন। যা মিথ্যা ও বানোয়াট এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

স্থানীয় সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুলের সাথে এ বিষয়ে জানতে তার মোবাইলফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, তিনি কোন টেন্ডারবাজির সাথে জড়িত নন। চিনিকল কর্তৃপক্ষ তাদের নিয়ম অনুযায়ী কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন। তিনি করোনা মোকাবেলায় রাতদিন কাজ করে চলেছেন। ইতিপূর্বে যারা ক্ষমতায় ছিলেন তারা সব সময় অনিয়মের মাধ্যমে সুবিধা নিয়েছেন। এখন অবৈধভাবে সুবিধা নিতে না পেরে এমন মিথ্যাচার করছেন। আমি আমার নির্বাচনী এলাকাকে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে কাজ করে যাচ্ছি। তাই সুবিধাভোগীরা এসব মিথ্যাচার করে সুবিধা আদায়ের পাঁয়তারা শুরু করেছেন।

করোনা আক্রান্ত দিনাজপুরে এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু

করোনা আক্রান্ত দিনাজপুরে এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু



 
দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ  করোনায় আক্রান্ত দিনাজপুরের বীরগঞ্জ থানার এনামুল হক নামে এক পুলিশ সদস্যের (কনস্টেবল) মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে দিনাজপুরে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৬ জনে। 
বীরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল মতিন প্রধান বলেন-  দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আইসোলশনে চিকিৎসাধীন থাকা এনামুল হককে উন্নত চিকিৎসার জন্য আজ বুধবার সকালে ঢাকা নেয়ার পথে চান্দিনায় তার মৃত্যু হয়। 
তার বাড়ি পঞ্চগড়ে। তিনি করোনায় আক্রান্ত ছাড়াও আগে থাকেই তার হার্টের সমস্যা ছিল।  
এর আগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দিনাজপুরের সদর উপজেলায় একজন, চিরিরবন্দর উপজেলায় দুইজন, পাবর্তীপুরে একজন, বোচাগঞ্জে এক জনের মৃত্যু হয়। সর্বশেষ মারা গেলেন পুলিশ সদস্য এনামুল হক।
উল্লেখ্য, দিনাজপুর জেলায় এপর্যন্ত করোনা সনাক্ত হয়েছে ৩৩৮ জন। সুস্থ্য হয়েছে ১০১ জন। হোম আইসোলেশনে আছে ১৮৪জন, প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে আছে ২৭ জন এবং হাসপাতালে ভর্তি আছে ৬ জন। 

করোনার আপডেট

করোনার  আপডেট



 
নিউজ ডেস্কঃ( ১০/০৬/২০২০ইং)
গত ২৪ ঘন্টায় নতুন শনাক্ত - ৩১৯০ , মোট শনাক্ত-  ৩৭১০১২, মৃত্যু- ৩৭, মোট মৃত্যু- ১০১২, সুস্থ - ৫৬৩,মোট সুস্থ -  ১৫৮৯৯, 
নমুনা পরীক্ষা-  ১৫৯৬৫ জন।
উৎস্যঃ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

হিলিতে করোনা উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু

হিলিতে করোনা উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু




দিনাজপুর  প্রতিনিধিঃ-দিনাজপুরের হিলিতে নমুনা দেওয়ার ৯ দিন পর করোনা উপসর্গ নিয়ে সাহেব আলী (৫৫) নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে।
আজ বুধবার উপজেলার  জাংগই গ্রামের নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় তিনি মারা যান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুর সিভিল সার্জন আব্দুল কুদ্দুস আলী।
তিনি জানান, সাহেব নামের একজন করোনা উপসর্গ নিয়ে আজকে মারা গেছে। তিনি নায়ারনগঞ্জে কর্মরত ছিলেন। সেখান থেকে গত ১০ দিন আগে জ্বর,সর্দি, শ্বাসকষ্ট নিয়ে বাসায় আসে। এরপর তিনি ৯ দিন আগে নমুনা দিয়েছে,তবে তার নমুনা পরীক্ষা ফলাফল এখনও পাওয়া যায়নি।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুর রাফিউল আলম জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে জানাযা শেষে কবরস্থ করা হবে।

নাগরপুরে হ্যান্ডস্যানিটাইজার দিয়ে শ্রমিকদের হাত জীবাণু মুক্ত করে দিলেন দুয়াজানী কলেজ পাড়ার ছাত্র সমাজ

নাগরপুরে হ্যান্ডস্যানিটাইজার দিয়ে শ্রমিকদের হাত জীবাণু মুক্ত করে দিলেন দুয়াজানী কলেজ পাড়ার ছাত্র সমাজ




  হাসান সাদী, নাগরপুর(টাংগাইল)প্রতিনিধি:মহামারী করোনা ভাইরাস প্রার্দুভাবের কারণে  সারাবিশ্ব আজ অচল হয়ে  পড়েছে। দিন যত যাচ্ছে ততই করোনায় প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে অসংখ্যক মানুষের।ঠিক তখনই দুয়াজানী কলেজ পাড়া ছাত্রকল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে এবং প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা.এম.এ.মান্নান এর নেত্বতে মহামারী করোনা ভাইরাস(কোভিড-১৯)প্রতিরোধের সচেতনতার অংশ হিসাবে নাগরপুরে রিক্সা, ভ্যান শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য তাদেরকে হ্যান্ডস্যানিটাইজার দিয়ে দুহাত জীবাণুমুক্ত করা হয়  এবং নিয়মিত হ্যান্ডস্যানিটাইজার দিয়ে হাত জীবানুমুক্ত করার জন্য অনুরোধ করা হয়।             আজ বুধবার ১০ জুন ২০২০ খ্রি.সকাল ১০.০০ টায় নাগরপুর বাজারে বিভিন্ন পয়েন্টে ঘুরে ঘুরে দুয়াজানী কলেজ পাড়ার ছাত্র কল্যান পরিষদের  প্রতিনিধিগণ জীবানুনাশক তরল স্প্রে দিয়ে হাত জীবানুমুক্ত কার্যক্রম কর্মসৃচী পালন করেছেন।সরাসরি উপস্থিত  থেকে কার্যক্রম পরিচালনা করেন  দুয়াজানী কলেজ পাড়া ছাত্র কল্যান পরিষদের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও কলেজ ছাত্র মো.ফয়জুল রহমান,সহ প্রচার সম্পাদক ও কলেজ ছাত্র মো.ওবাইদুল্লাহ,স্কুল ছাত্র মো.রুবেল ও স্কুল ছাত্র জনপ্রিয়  ফুটবলার মো.ইমাম হোসেন প্রমুখ।

অসহায় দুস্থদের মাঝে মানিকগঞ্জে কৃষক দলের ত্রাণ বিতরণ

অসহায় দুস্থদের মাঝে মানিকগঞ্জে কৃষক দলের ত্রাণ বিতরণ





 এস কে সুমন, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধিঃ


পৃথিবী আজ অসহায় করোনা ভাইরাসের কাছে।করোনার বিষাক্ত ছবল থেকে বাদ পড়েনি ঘনবসতিপূর্ণ ছোট্ট বাংলাদেশও। সারাদেশে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সংগঠন ও ব্যক্তি উদ্যোগে চলছে ত্রাণ বিতরণ।  এরই ধারাবাহিকতায় জাতীয়তাবাদী কৃষক দল মানিকগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে গরীব, দুস্থ ও কর্মহীন মানুষের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেছে।

  মানিকগঞ্জ শহরের সেওতা এলাকায় ওয়্যারলেটে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে দুই শতাধিক মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। এ সময় উপস্হিত ছিলেন ডক্টর এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ এর যুগ্ম মহা সচিব ডাঃ জিয়াউর রহমান জিয়া, জেলা যুব দলের ভারপ্রাপ্ত  সভাপতি জি,এম,রফি(অপু),    জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের জেলা আহবায়ক মোঃ জামিল উদ্দিন মনি, সদস্য সচিব এড্যাভোকেট মুস্তাফিজুর বিশ্বাস মিলন, ফরিদ আল মামুন, (বি,এস,সি)প্রফেসর ফেরদৌস রহমান, জাহিদুল ইসলাম মাষ্টার, আবু বক্কর সিদ্দিক, এড্যাভোকেট জাহিদুর রহমান তালুকদার, মোঃ ফারুক প্রধান,কাজী হান্নান বাবুল প্রমূখ।

চট্টগ্রামের দুই ইপিজেডে আইসোলেশন ও করোনা পরিক্ষার জোর দাবি -খুরশেদ আলম সুজনের

চট্টগ্রামের দুই ইপিজেডে আইসোলেশন ও করোনা পরিক্ষার জোর দাবি -খুরশেদ আলম সুজনের





মোঃ হাসান রিফাত,
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

সিইপিজেড এবং কেইপিজেডে আইসোলেশন সেন্টার এবং করোনা পরীক্ষাগার চালু করতে মহাব্যবস্থাপকদ্বয়ের নিকট বিনীত আহবান জানিয়েছেন জনদুর্ভোগ লাঘবে জনতার ঐক্য চাই শীর্ষক নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন। তিনি আজ মঙ্গলবার (৯ই জুন ২০২০ইং) সকালে সিইপিজেড এবং কেইপিজেড এর মহাব্যবস্থাপকদ্বয়ের সাথে দীর্ঘক্ষণ টেলিফোনে আলোচনা করে উপরোক্ত আহবান জানান।

এ সময় সুজন বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণে অর্থনৈতিক আঘাত থেকে বাংলাদেশের রপ্তানি আয়ের প্রধান খাত তৈরি পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের বাঁচাতে সর্বপ্রথম গার্মেন্টস সেক্টরে পাঁচ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনার ঘোষণা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী এ সিদ্ধান্তে দেশের রপ্তানিমূখী শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট মালিক এবং শ্রমিকসহ সকলের মাঝে স্বস্তি নেমে এসেছে। পরবর্তীতে সরকার দেশের রপ্তানি বাণিজ্য স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে স্বাস্থ্য বিধি মেনে ইপিজেডসমূহ চালু করার নির্দেশনা প্রদান করেছে। অত্যন্ত গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে বেশীরভাগ প্রতিষ্টানেই স্বাস্থ্য বিধি না মেনে কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। এছাড়া সামাজিক দূরত্বও পুরোপুরি উপেক্ষিত হচ্ছে প্রতিষ্টানসমূহে। এতে করে দেশের অর্থনৈতিক বাণিজ্যের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খাত ইপিজেডসমূহে করোনা সংক্রমণ উচ্চ ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। তাছাড়া কোন প্রতিষ্টানের কর্মী অসুস্থ হলে তাকে বাধ্যতামূলকভাবে বাড়ীতে অবস্থানের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। অথচ একজন গার্মেন্টস কর্মী যে পরিবেশে দিনাতিপাত করে সে পরিবেশে এ পরিস্থিতিতে বাড়ীতে অবস্থান করা কোনভাবেই সম্ভব নয়। তারপরও তাঁকে নিরূপায় হয়ে প্রতিষ্টানের নির্দেশনা মেনে বাড়ীতে অবস্থান করতে হচ্ছে। ফলত দেখা যাচ্ছে যে ঐ গার্মেন্টস কর্মীর পরিবারসহ এলাকাবাসীরও সংক্রমিত হওয়ার আশংকা থেকে যাচ্ছে। বিশেষ করে নগরীর গার্মেন্টস অধ্যুষিত এলাকাসমূহ যেমন ৩৭,৩৮,৩৯,৪০ এবং ৪১নং ওয়ার্ডের প্রায় বাসা বাড়ীতে জ্বর, সর্দি, কাঁশিসহ বিভিন্ন রোগের উপসর্গ দেখা দিচ্ছে। এতে করে ঐ সকল এলাকার অধিবাসীদের মাঝেও উদ্বেগ উৎকন্ঠা ছড়িয়ে পড়ছে। তিনি আরো বলেন সরকার প্রণোদনার একটি বিরাট অংশ গার্মেন্টস শিল্পের জন্য ব্যয় করছে অথচ করোনা পরিস্থিতিতে দেশের রপ্তানি আয়ের প্রধানতম খাত গার্মেন্টস শিল্পের মালিকদের রহস্যজনক নীরবতা আমাদেরকে হতবাক করছে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে বিভিন্ন প্রতিষ্টান নানারকম সামাজিক দায়িত্ব পালন করলেও গার্মেন্টস মালিকরা কোন প্রকার সামাজিক দায়িত্ব পালন করেনাই। উপরন্তু যে শ্রমিকদের রক্ত, ঘামে তাদের এতো বিত্ত বৈভব, প্রতিপত্তি সে সকল শ্রমিকদের প্রতি মালিকদের এরকম নিষ্টুরতা আমাদেরকে ব্যথিত করেছে প্রতিনিয়ত। তিনি অবিলম্বে গার্মেন্টস কর্মীদের জন্য নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় আইসোলেশন সেন্টার এবং করোনা পরীক্ষাগার চালু করার উদাত্ত আহবান জানান। এছাড়া কোন গার্মেন্টস কর্মী আইসোলেশন থাকা অবস্থায় কোম্পানী প্রদত্ত বেতন ভাতা থেকে যেন বঞ্চিত না হয় সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্য সিইপিজেড এবং কেইপিজেড এর মহাব্যবস্থাপকদ্বয়ের দৃষ্টি আকর্ষন করেন। তিনি কেইপিজেডে অবস্থিত নারী উন্নয়ন কেন্দ্রটি আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে প্রস্তুত করা যেতে পারে বলেও মত প্রকাশ করেন। জনাব সুজন মহাব্যবস্থাপকদ্বয়কে উপরোক্ত বিষয়ে দ্রুততার সাথে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার অনুরোধ জানান। তিনি রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ কর্তৃপক্ষের কর্মকান্ড গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন যদি কর্তৃপক্ষ দ্রুততার সাথে উপরোক্ত বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে ব্যর্থ হন তাহলে দেশের বৃহত্তম রপ্তানি কেন্দ্র সচল এবং নিরাপদ রাখার স্বার্থে নগরবাসীকে সাথে নিয়ে ইপিজেডসমূহে অবস্থান নিতে বাধ্য হবেন।

সিইপিজেড এর মহাব্যবস্থাপক মোঃ খুরশিদ আলম এবং কেইপিজেড এর মহাব্যবস্থাপক মসিউদ্দিন বিন মেজবাহ অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে জনাব সুজনের প্রস্তাবনার সাথে সহমত পোষন করেন। তারা বর্তমান পরিস্থিতিতে বাস্তবসম্মত প্রস্তাবনার জন্য সুজনকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। মহাব্যবস্থাপকগণ নিজেরাও এর প্রয়োজনীয়তা অনুধাবন করতে সক্ষম হন এবং দেশের রপ্তানি বাণিজ্যের অন্যতম গার্মেন্টস খাতকে নিরাপদ রাখতে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় আইসোলেশন সেন্টার চালুর উপরও গুরুত্ব আরোপ করেন। মহাব্যবস্থাপকদ্বয় জনাব সুজনের উত্থাপিত প্রস্তাবনাসমূহ লিখিত আকারে বেপজা কর্তৃপক্ষের নিকট উপস্থাপন করবেন বলে অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

মাধবপুরে বনের পাখিদের জন্য ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা

মাধবপুরে বনের পাখিদের জন্য ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা




লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের মাধবপুরে বনের পাখিদের জন্য ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা, সৃষ্টির আদিকাল থেকে মানুষ ও পাখি পরস্পরের উপর নির্ভরশীল। মানুষ ছাড়া পাখি বা পাখি ছাড়া মানুষ কল্পনা করা যায় না। এই ধরণীকে সুন্দর করে সাজাতে, সুন্দর করে বাঁচিয়ে রাখতে নিরবে নিভৃতে অবদান রেখে চলেছে আমাদের,

 পক্ষিকুল আমাদের খাদ্য, রোগ মুক্তির পথ্যসহ কত না বিষয়ে অকাতরে অবদান রেখে চলেছে তারা, তারা অবদান রাখছে প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষায়। পাখি যেমন প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষা করে তেমনি প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও বৃদ্ধি করে।
পাখি সৌন্দর্যের অন্যতম উপাদান।পাখি একদিকে মানুষের সৌন্দর্য পিপাসা,

 মেটায় অন্যদিকে কলকাকলিতে আনন্দ মুখর করে রাখে প্রকৃতিকে। বাংলাদেশের অপরূপ প্রকৃতির এক অপূর্ব উপহার পাখি। এদের মিষ্টি সুর আমাদের মুগ্ধ করে। ভোরে ঘুম ভাঙ্গা থেকে শুরু করে রাতে ঘুমানো পর্যন্ত এদের কলকাকলি শোনা যায় এক কথায় পাখি হয়ে গেছে আমাদের,

 পরিবেশের জন্য চরম এক অনুসঙ্গ।পাখির প্রতি আছে আমাদের গভীর ভালোবাসা। এই ভালোবাসা থেকেই কবিদের কবিতায় পাখি উঠে এসেছে বারবার। এদেশের অসংখ্য কবি সাহিত্যিকগণ মনের মাধুরী মিশিয়ে পাখি নিয়ে লিখেছেন অনেক মুগ্ধকর আর প্রাণস্পর্শী কবিতা যা আমাদের কবিতার,

 ভান্ডারকে সমৃদ্ধ করেছে এই সমৃদ্ধতার, সোনালী রাস্তায় যার কথা শ্রদ্ধার সাথে করা যায় তিনি বাংলা সাহিত্যের নোবেলবিজয়ী কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তিনি পাখি নিয়ে লিখেছেন চমৎকার কবিতা। যেমন-খাঁচার পাখি ছিল সোনার খাচাঁটিতে বনের পাখি ছিল বনে একদা কী করিয়া মিলন হল দোঁহে, কি ছিল,

 বিধাতার মনে বনের পাখি বলে খাঁচার, পাখি ভাই, বনেতে যাই দোহেঁ মিলে। খাচারঁ পাখি বলে বনের পাখি, আয় খাচাঁয় থাকি নিরিবিলে। বনের পাখি বলে না, আমি শিকলে ধরা নাহি দিব।

কুয়েতের সফল বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ রোকনুজ্জামান (রোকন) এর পক্ষথেকে ত্রাণ বিতারণ

কুয়েতের সফল বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ রোকনুজ্জামান (রোকন) এর পক্ষথেকে ত্রাণ বিতারণ



দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুর কুয়েত প্রতিনিধিঃ

কোটচাঁদপুর উপজেলা  কুশনা ইউনিয়নের কৃতি সন্তান বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক জনাব, মোঃ রোকনুজ্জামান (রোকন) ভাই  কুশনা ইউনিয়নের  করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি তে দিনমজুর, খেটে খাওয়া শ্রমজীবী, কর্মহীন ৫০০ পরিবারের  মাঝে খাদ্য সহয়তা প্রদান করেন। 

মানুষের  দরজায় পৌঁছে  দেন মোঃ রোকনুজ্জামান এর পক্ষথেকে তার ছোট ভাই সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাহারুজ্জামান সবুজ সহযোগিতা করেন আওয়ামী লীগ,  যুবলীগ, এবং  সাবেক ও বর্তমান ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।
মানুষ মানুষের জন্য জীবন জীবনের জন্য অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে পেরে জনাব, রোকনুজ্জামান (রোকন) বলেছেন আমার ব্যক্তি গত সাধ্যমত আমি চেষ্টা করেছি এতেই আমি ধন্য ইনশাআল্লাহ আমার সমর্থন অনুযায়ী আমি আরো সহযোগীতা করবো ইনশাআল্লাহ। এদিকে ঐ এলাকার মানুষে অনেক
 অনেক ধন্যবাদ জানান  এভাবে অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানোর জন্য। সবাই 
আল্লাহর দোয়া প্রার্থনা করেন রোকনুজ্জামান  ভাই কে যেনো আল্লাহ সুস্থ রাখেন (আমীন)

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে স্বপ্নের সেতু থেকে লাফ দিয়ে দুই শিক্ষার্থী নিখোঁজের পর লাশ উদ্ধার

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে স্বপ্নের সেতু থেকে লাফ দিয়ে দুই শিক্ষার্থী নিখোঁজের পর লাশ উদ্ধার




মো: আ: হামিদ মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইল জেলার মধুপুর উপজেলার পার্শবর্তী ঘাটাইল উপজেলার নব গঠিত সংগ্রামপুর ইউনিয়নের বংশাই নদীর উপর নির্মিত স্বপ্নের সেতু থেকে লাফ দিয়ে দুইজন শিক্ষার্থী নিখোঁজের ঘটনায় একজনকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ওই দিনই ৩ঘন্টা চেষ্টার পর উদ্ধার করলেও অপরজন ছনখোলা গ্রামের আব্দুর রহমান খানের ছেলে ফারুক খান (২০) কে অনেক খোঁজাখুজি করেও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল উদ্ধার করতে না পেরে বিগটিম উদ্ধার কার্ষক্রম ৭ই জুন রবিবার সন্ধ্যায় স্থগিত করেন। ৮ই জুন সোমবার সকাল ১০টা ৩০ মিনিটের সময় প্রায় উক্ত ঘটনাস্থল থেকেই কাঁদা মাখা ফারুকের লাশ নদীর তলদেশ থেকে ভেসে উঠতে দেখে স্থানীয় লোকজন নদী থেকে তুলে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন। এই মর্মান্তিক লোমহর্ষক ঘটনায় পুরো এলাকা জুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন- মুলত আব্দুল্লাহ ও ফারুক  দুইজনই সাতার কম জানার কারনে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে। প্রথমে আব্দুল্লাহ সেতুর উপর থেকে নদীতে লাফ দিয়ে যখন তলিয়ে যাচ্ছিল তখন ফারুক উদ্ধার করতে কাছে গেলে আব্দুল্লাহ জীবন রক্ষার্থে পানির নীচ থেকে ফারুকের পা আঁকড়ে ধরে। যার ফলে দুজনই নদীর তলদেশে চলে যায় এবং মৃত্যুবরণ করেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

টাঙ্গাইলে এমপি তানভীর হাসানের নিকট করোনা প্রতিরোধক হোমিও ওষুধ Ars.Alb-30 হস্তান্তর

টাঙ্গাইলে এমপি তানভীর হাসানের নিকট করোনা প্রতিরোধক হোমিও ওষুধ Ars.Alb-30  হস্তান্তর





   
ডা.এম.এ.মান্নান, টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি:
বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ড এর নির্দেশে টাঙ্গাইল হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের  পক্ষ থেকে টাংগাইল (গোপালপুর-ভুয়াপুর) আসনের সংসদ সদস্য জ্বনাব তানভীর হাসান ছোট মনির নিকট মহামারী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)প্রতিরোধক হোমিও ওষুধ বা ইমিউনিটি বুষ্টার ডোজ আর্সেনিকাম এ্যালবাম- ৩০ বিতরণ হস্তান্তর করা হয়েছে।

মঙ্গলবার,৯ জুন ২০২০ খ্রি. সকালে করোনা মহামারীর প্রতিরোধক বা ইমিউনিটি বুস্টার হোমিও মেডিসিন আর্সেনিকাম অ্যালবাম-৩০ হস্তান্তর করা হয়।
অনুষ্ঠানে বিশেষভাবে সময় দেন টাঙ্গাইল চেম্বার এন্ড কমার্স -এর সাধারণ সম্পাদক জ্বনাব মো.গোলাম কিবরিয়া বড় মনি। কলেজের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন টাংগাইল হোমিও মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সুযোগ্য অধ্যক ও সাবেক বোর্ড মেম্বার ডা. সাহিদা আক্তার।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ডের  সদস্য ও সহযোগী অধ্যাপক ডা.কায়েম উদ্দিন, সহযোগী অধ্যাপক ও সাবেক বোর্ড মেম্বার ডা.মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, ডা.সৈয়দ এমরান আলম, ডা.শাহাদাত হোসেন বাবলু প্রমূখ।
ওষুধ হস্তান্তরকালে এমপি মহোদয়ের কাছে হোমিওপ্যাথির বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরা হয়। এসময় তিনি সরকারের দৃষ্টিগোচর করার জন্য সংসদে বিষয়টি তুলবেন বলে আশ্বাস দেন।বাংলাদেশে প্রায় এক লক্ষ হোমিও চিকিৎসক এবং তাদের সাথে যুক্ত লক্ষ লক্ষ পরিবার -এর পক্ষ থেকে সংসদ সদস্যকে ধন্যবাদ জানানো হয়। অনুষ্ঠানে হোমিওপ্যাথির গতিশীল নেতৃত্বের জন্য বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ডের চেয়ারম্যান হোমিওরত্ন ডা. দিলীপ কুমার রায় ও রেজিস্ট্রার কাম সেক্রেটারি ডা. জাহাঙ্গীর আলমের ভূয়শী প্রশংসা করা হয়।

ঝিনাইদহে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান

ঝিনাইদহে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 



৯ জুন ২০২০ খ্রি: তারিখে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মহোদয়ের সার্বিক নির্দেশনা এবং জেলা প্রশাসক মহোদয়ের তত্ত্বাবধানে ঝিনাইদহ জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক এর নেতৃত্বে ঝিনাইদহ শহরের বিভিন্ন এলাকায় ফার্মেসি তদারকি করা হয়। 

গত কয়েকদিন ধরে ঔষধের অধিক মূল্য ও মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ বিষয়ক একাধিক অভিযোগের ভিত্তিতে এ তদারকি করা হয়। আশাব্যঞ্জক খবর হল ক্রেতা সেজে কয়েকটি ফার্মেসিতে ঔষধ কিনতে গিয়ে ঔষধের মূল্য বৃদ্ধির কোন প্রমান পাওয়া যায়নি। 

এসময় মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ সংরক্ষণ ও বিক্রয়ের অপরাধে প্রধান ফার্মেসিকে ৩০০০/- ও নিষিদ্ধ ঘোষিত ঔষধ ও মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ সংরক্ষণ ও বিক্রয়ের অপরাধে বিউটি ফার্মেসিকে ১৫০০০/- প্রশাসনিক ব্যবস্থা হিসেবে জরিমানা করা হয়। 

পাশাপাশি ব্যবসায়ীদেরকে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা, নির্ধারিত মূল্যে ঔষধ বিক্রয় করতে এবং আবশ্যিকভাবে মাস্ক পরিধান করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়। সার্বিক সহযোগিতা করেছেন জনাব শংকর কুমার নন্দী, পৌরসভা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর ও ঝিনাইদহ জেলা পুলিশের একটি টিম। জনস্বার্থে এ অভিযান চলমান থাকবে৷

চৌগাছায় সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল চালক নিহত

চৌগাছায় সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল চালক নিহত




মোরশেদ আলম 
যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি । 

যশোরের চৌগাছায় ট্রাক চাপায় এনামুল (৩২) নামে এক মোটরসাইকেল চালক নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দুুপুর আড়াইটার দিকে চৌগাছা-পুড়াপাড়া সড়কের শ্যামনগর মোড়ের পুড়াপাড়া ফিলিং ষ্টেশনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

তিনি চৌগাছা উপজেলার স্বরূপদাহ ইউনিয়নের চুটারহুদা গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে চুটারহুদা গ্রামের এনামুল একটি টিভিএস মোটরসাইকেলে (যশোর-হ-১৭-১৫০৭) করে পুড়াপাড়া বাজার হয়ে চৌগাছার দিকে আসছিলেন।

এসময় চৌগাছা-পুড়াপাড়া সড়কের শ্যামনগর মোড়ে অবস্থিত পুড়াপাড়া ফিলিং স্টেশনের সামনে পৌছলে চৌগাছা থেকে পুড়াপাড়াগামী একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট ১৪-৫৬০৮) সামনের চাকায় তাকে পিষ্ট করে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। বিকাল সাড়ে তিনটায় ট্রাকের চাকার নিচ থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে মহেশপুর থানায় নেয় মহেশপুর থানা পুলিশ।

চৌগাছা থানার সেকেন্ড অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বিপ্লব রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থলটি ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর থানার মধ্যে পড়েছে। সেখানে চৌগাছা থানার পুলিশের একটি দল রয়েছে। মহেশপুরের পুলিশও এসে পৌঁছে যাবে। তিনি বলেন, এ ঘটনায় মহেশপুর থানায় মামলা হবে।

ঝিকরগাছার রফিকুলকে লিবিয়ায় পাচার,মামলা দায়ের, আটক -২!

ঝিকরগাছার রফিকুলকে লিবিয়ায় পাচার,মামলা দায়ের, আটক -২!



স্টাফ রিপোর্টারঃ   যশোর ঝিকরগাছার খাটবাড়িয়া গ্রামের রফিকুল ইসলামকে লিবিয়ায় পাচার ও হত্যা মামলায় দুইজনকে আটক করেছে সিআইডি পুলিশ। আটকৃতরা হলো ঝিকরগাছার বাঁকড়া আলীপুর গ্রামের মৃত আব্দুল জব্বার বিশ্বাসের ছেলে মতিয়ার রহমান ও মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে আজিজুর রহমান ভুট্টো। আটক দুইজন আদালতে স্বীকারোক্তিতে তারা কোনো দিন কাউকে লিবিয়ায় পাঠায়নি বলে জবানবন্দিতে জানিয়েছে। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মামুনুর রহমান আসামিদের জবানবন্দি গ্রহণ শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

জবানবন্দিতে মতিয়ার রহমান জানিয়েছে, সে দীর্ঘ সাড়ে ৪ বছর মালয়েশিয়ায় কর্মরত ছিলো। মালয়েশিয়া থাকা অবস্থায় একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লার্ক ময়মনসিংহের একজনের সাথে পরিচয় হয়। তার পাঠানো স্টুটেন্ড ভিসায় ঢাকার ফকিরাপুলের একটি এজেন্সির মাধ্যমের আত্মীয়স্বজনসহ ৪০/৪২ জনকে মালয়েশিয়া পাঠিয়েছে।

অপরদিকে আজিজুর রহমান জানিয়েছে, ২০১৩ সালে তার এক ভাতিজা মালয়েশিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করত। তার পাঠানো কাগজপত্রে ২০ জনকে মালয়েশিয়া পাঠিয়েছে। তিনি প্রত্যেকের কাছ থেকে তখন ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা থেকে ২ লাখ টাকা নিয়েছেন।

লিবিয়ায় মানব পাচারকারীদের গুলিতে নিহত রফিকুল ইসলামকে তারা লিবিয়ায় পাঠায়নি। তারা মালয়েশিয়া ছাড়া অন্য কোনো দেশে লোক পাঠায়নি বলেও জানিয়েছে।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, গত ১০ ফেব্রুয়ারি রফিকুল ইসলাম লিবিয়ার ত্রিপলিতে যাবে বলে বাড়ি থেকে ৪ লাখ টাকা নিয়ে মানবপাচারকারী দলের সদস্য দাদা নামে এক লোককে দেয়ার জন্য ঢাকায় যায়। পরদিন ঢাকা থেকে কলকাতা যায় রফিকুল। ১৭ ফেব্রুয়ায়ির রফিকুল তার বড় ভাইয়ের ইমোতে জানায়, সে লিবিয়ার বেনগাজিতে অবস্থান করছে। বিমান চলাচল না করায় কয়েকদিন তাদের সেখানে অবস্থান করতে হবে। পরদিন রফিকুল তার ভাইকে জানায়, মানবপাচারকারী দলের সদ্যরা তাকে পাচার করে মিসদাহ নিয়ে আটকে রেখে নির্যাতন করছে। তারা মুক্তিপণ বাবদ ১২ হাজার ইউএস ডলার দাবি করেছে। এরপর টাকার জোগাড় হয়েছে কিনা ফোন দিয়ে খোঁজ নিত। মুক্তিপণ না দিলে তাকে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দিত বলে সে তার বড় ভাইকে জানায়। ২৮ ফেব্রুয়ারি সংবাদ মাধ্যমে রফিকুল ইসলামের পরিবার জানতে পারে মানব পাচারকারীর গুলিতে রফিকুলসহ ২৬ জন নিহত হয়েছে।

এ ব্যাপারে নিহত রফিকুলের পিতা ইসরাইল হোসেন গত ৬ জুন অজ্ঞাত পরিচয়ে ব্যক্তিদের আসামি করে ঝিকরগাছা থানায় পাচার ও হত্যার অভিযোগে মামলা করেন। এ মামলার তদন্তের দায়িত্ব পায় সিআইডি পুলিশ। রফিকুল ইসলামকে লিবিয়ায় পাচার  ও হত্যা সাথে জড়িত সন্দেহে ওই দুইজনকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। আটক মতিয়ার ও আজিজুর রহমান আদালতে ওই জবানবন্দি দিয়েছে।

 

করোনা ভাইরাস বনাম সিজনাল ভাইরাসের তফাৎ এবং হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা প্রদান

করোনা ভাইরাস বনাম সিজনাল ভাইরাসের তফাৎ এবং হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা প্রদান
 



প্রতিবেদন:ডা.এম.এ.মান্নান
বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে ঋতু পরিবর্তনে জ্বর, সর্দি,কাশি ,গলাব্যথা, শরীর ব্যাথা সকলেরই কমবেশি হচ্ছে। কিন্তু করোনার প্রাইমারি লক্ষণ যেহেতু মৃত জ্বর ,শুকনো কাশি, গলাব্যথা তাই সামান্য অসুস্থ হলে লোকে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন। কিন্তু সব জ্বর ,সর্দি-কাশি করোণা নয়। সর্দি ,জ্বর ,কাশি, মাথা ব্যাথা সিজনাল ভাইরাস ফ্রুয়েরও লক্ষণ। এই সময় গরম ঘামে বা বৃষ্টিতে ভিজলে যা হয়ে থাকে। তবে ঠান্ডা লেগে সর্দি-কাশি হলে তাতে কফ উঠে আসে, যাকে আমরা ওয়েট বলি। করোনার ক্ষেত্রে তা কিন্তু শুকনো কাশি, গলা ব্যথা, গলা শুকিয়ে যাওয়া এবং কষ্টকর কাশি। সেকেন্ডারি পর্যায়ে উচ্চ জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। তবে করোনা শুধু কাশির তফাতেই এই বোঝা যাবে এমন তথ্য এখনো বিশদ ভাবে প্রমাণিত হয়নি। ড্রাই কফ আরো বহু কারণে হতে পারে যেমন ফুসফুসে ক্রমিক সমস্যা রয়েছে (COPD) কার্ডিয়াক এজমা পালমোনারি ইন্সাফিশিয়েন্সি ক্রুপকাফ এবং যারা অতিরিক্ত ধূমপান করেন তারা সারা বছরের শুকনো কাশিতে ভোগেন। করোনা আক্রান্ত হলে পর্যায়ক্রমে শুকনো কাশি সঙ্গে থাকবে গলা ব্যথা শ্বাসকষ্ট দুর্বলতা এবং কিছুক্ষেত্রে পাতলা পায়খানা। যেহেতু এটি ফুসফুসে আক্রমণ করে তাই অনেকেই নিউমোনিয়া সঙ্গে একে গুলিয়ে ফেলেন। কিন্তু করোনা সংক্রামক এবং নিউমোনিয়া সম্পূর্ণ আলাদা জিনিস। অত্যাধিক দুর্বলতা ও শুকনো কাশি শ্বাসকষ্ট লাগলেই অবিলম্বে রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করা উচিত। সিজনাল সমস্যা মনে করে অবহেলা বা লুকিয়ে রাখবেন না। সমস্যা ফলে আর তা ফেলে রাখলেই যে কোনো জটিলতা বাড়ে। করোনা ভাইরাস সনাক্তকরণ শুধুমাত্র কফ পরীক্ষা দিয়েই হয়। যত্রতত্র থুথু, কফ ফেলবেন না। হাসি কাশি এবং সর্দিতে রুমাল বা টিস্যু ব্যবহার করুন। ব্যবহারের পর তা নির্দিষ্ট স্থানে ফেলুন। করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হলেই মৃত্যু আসন্ন এমনটা একেবারেই ঠিক নয়। সঠিক সময়ে সঠিক চিকিৎসায় দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠা সম্ভব। প্রাকৃতিক ব্যবস্থা হিসাবে ঘনঘন কুসুম তরল পান উষ্ণ তাপ নাকি নেয়া, গরম জলে লবণ মিশিয়ে গড়গড়া করা, ঠান্ডা ও ফ্রিজের খাবার পরিহার করা, স্বাস্থ্যবিধি মানলে অনেকক্ষেত্রে করোনা সংক্রামক হ্রাস করা সম্ভব এবং শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে নিয়মিত সুষম খাদ্য গ্রহণ শারীরিক ব্যায়াম সপ্তাহে পাঁচ দিন বিশ মিনিট সময় উন্মুক্ত ত্বকে প্রখর রুদ্র লাগানোসহ পর্যাপ্ত ঘুম যাওয়া অপরিহার্য। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ক্ষেত্রে লক্ষণ ভিত্তিক চিকিৎসা হিসেবে হোমিওপ্যাথি একটি নির্ভরশীল ও যুগান্তকারী চিকিৎসা ব্যবস্থা হিসেবে ভূমিকা রাখতে পারে। চিকিৎসা বিজ্ঞানী ডাঃ স্যামুয়েল হ্যানিমান প্রায় দুইশো বছর পূর্বে এজাতীয় নতুন নতুন ভাইরাস ব্যাকটেরিয়া প্যারাসাইট ঘটিত বিভিন্ন প্রাণঘাতী মহামারীর চিকিৎসায় সফলতা প্রমাণ এবং কিভাবে গুলির লক্ষণ ভিত্তিক চিকিৎসা দিতে হবে সে সম্পর্কে তার অমূল্য গ্রন্থ অর্গানলে ধারণা দিয়ে গেছেন। বর্তমান বৈশ্বিক প্রাণঘাতী মহামারী করোনা সংক্রমিত হলে আমরা দুটি ধাপে ভাগ করে লক্ষণ ভিত্তিক হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা দিতে পারে। প্রাথমিক পর্যায়ে মৃদু জ্বর শুকনো কাশি নাক জ্যাম শুকনো কাশি সহ গলা ব্যথার লক্ষণ অনুযায়ী হোমিওপ্যাথিক ঔষধ Bryoria alb, Justicca adatida, Droscra, Hepar sulp, Marc sol, Marc lod, Arsenic lod, Kali Bich প্রভৃতি ঔষধ হতে সর্বোত্তম সদৃশ্য ঔষধ দিয়ে দ্রুত ও কার্যকর চিকিৎসা দিতে পারি। চূড়ান্ত পর্যায়ে লক্ষণ তথা ফুসফুস আক্রান্ত হলে রোগীর ক্ষেত্রে উচ্চ জ্বর, শুকনো কাশি, শ্বাসকষ্ট, বুকে ভারিরোধ, তীব্র দুর্বলতা, অক্সিজেনের অভাববোধ,হাত পা অবশবোধ রক্তচাপে ছন্দবৈকল্য প্রভৃতি দেখা দিলে রোগীকে হসপিটাল লাইজেশন করা দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে এবং হোমিওপ্যাথিক ঔষধ Antim tart, Camphora, Carbo veg, Arsenic alb, Aconit nap, Spongia tosta, Sambucus, Phosphorus, Cuprum Ars, Natrum Sulp প্রভৃতি ঔষধ হতে সর্বোত্তম সাদৃশ্য ঔষধ প্রয়োগ করে আশু মৃত্যু পথযাত্রী রোগীকে বাঁচানো সম্ভব ইনশাআল্লাহ।

লেখক : ডা: এ কে এম ফজলুল হক সিদ্দিকী, বোর্ড মেম্বার, বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ড, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক বঙ্গবন্ধু হোমিওপ্যাথিক ডক্টরস।