কিশোরগঞ্জে রাতের আধারে গাছ কেটে দিল দুর্বৃত্তরা

কিশোরগঞ্জে রাতের আধারে গাছ কেটে দিল দুর্বৃত্তরা





মো:লাতিফুল  আজম
কিশোরগঞ্জ  নীলফামারী প্রতিনিধি :


গাছের সাথে শক্রুতা করে রাতে গাছপ্রেমিক আনছারের ১ হাজার বিভিন্ন প্রজাতির বনজ গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের ঘোপাপাড়া গ্রামে।

উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের ঘোপাপাড়া গ্রামের মৃত সাবাজ উল্লাহ’র পুত্র আনছার আলী একজন গাছপ্রেমিক মানুষ। বাড়ির পাশে বাঁশঝাড় সংলগ্ন ৫ বিঘা জমিতে ৩ বছর আগে মেহগনি, সেগুন, সোনাআলু, গামার, বেলজিয়াম, আকাশমনিসহ বিভিন্ন প্রজাতির বনজ প্রায় ১ হাজার গাছ লাগান। গাছগুলো বেশ বড় হয়ে উঠছিল। গত ১৫ জুন রাতে দুর্বৃত্তরা গাছগুলোর গোড়া কেটে মাটিতে ফেলে দেয়। আনছার আলী ১৬ জুন সকালে বাগানে গিয়ে দেখতে পায় তার লাগানো বিভিন্ন প্রজাতির ১ হাজার গাছ দুর্বৃত্তরা কেটে ফেলেছে। আনছার আলী আজ শুক্রবার এ প্রতিবেদককে গাছগুলো দেখাতে দেখাতে কান্নাজড়িত কন্ঠে জানান- গাছ গুলো আমি বাচ্চার মত করে বড় করছিলাম। গাছের সাথে শক্রুতা করে দুর্বৃত্তরা রাতে গাছগুলো কেটে ফেলেছে। যেন দুর্বৃত্তদের শক্রু হচ্ছে গাছ। তিনি আরও জানান- কিশোরগঞ্জ থানায় মৌখিক অভিযোগ দিলে থানা কর্তৃপক্ষ সরেজমিন দেখে গেছেন। তিনি সুষ্ঠু তদন্ত করে তাদের বিচার দাবি করেন।

গাছপ্রেমিক আনছার আলীর এ বাগান ছাড়াও ৯ বিঘার জমির উপর চায়না থ্রি ও ৮ বিঘা জমির উপর বিভিন্ন বনজ গাছের বাগান রয়েছে। এছাড়া বাড়ির উঠানে ও বাড়ির ভিতরে বিদেশী এবং দেশীয় বিভিন্ন গাছ রয়েছে। এসব গাছ নিয়ে তিনি চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। তিনি প্রায় ৪০ বছর থেকে গাছের পরিচর্যা করে আসছেন।

কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এম হারুন অর রশিদ ঘটনা স্বীকার করে জানান- মৌখিক অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানা থেকে লোক পাঠিয়েছিলাম। অভিযোগকারীকে লিখিত অভিযোগ দেয়ার কথা বললে তিনি এখন পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ করেনি।

সড়ক দূর্ঘটনায় দুই সাংবাদিক আহত

সড়ক দূর্ঘটনায় দুই সাংবাদিক আহত





  রাজশাহী ব্যুরো
নাটোরের বড়াইগ্রামে আহমেদপুর বাজার  এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় স্থানীয় দুই সাংবাদিক আহত হয়েছেন।
শুক্রবার দুপুর দুইটার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
আহত দুই সাংবাদিক হলেন জেটিভি অনলাইন নাটোর জেলা প্রতিনিধি নাহিদুল ইসলাম  ও মুভি  বাংলা টিভির  জেলা প্রতিনিধি   জাহিদ  আলী।

সাংবাদিক নাহিদ জানান, পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য আমি ও জাহিদ মোটরসাইকেলে   নাটোর এসপি অফিসের প্রেস ব্রিফিং শেষ করে বনপাড়া উদ্দেশ্যে রওনা হই। আহমেদপুর বাজার এলাকায় আসলে আম ভর্তি একটি অটোভ্যানের এক্সেল ভেঙ্গে হঠাৎ সামনে এসে পড়ে।সে সময়  মোটরসাইকেলটি জাহিদ নিয়ন্ত্রণ  করতে না পারায় এমন দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় লোকজন আহত সাংবাদিকদের উদ্ধার করে  স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে।

কুমিল্লার মুরাদনগরে করোনায় হিন্দুব্যক্তির সৎকারে ১০ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন

কুমিল্লার মুরাদনগরে করোনায়  হিন্দুব্যক্তির সৎকারে ১০ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন




শাহ আলম জাহাঙ্গীর
ব্যুরো চিফ কুমিল্লা


 কুমিল্লার মুরাদনগরে করোনা ভাইরাসে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মৃতদেহ সৎকারে  ১০ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। আজ শুক্রবার ১৯ জুন বিকেলে উপজেলার রহিমপুর অযাচক আশ্রমে সৎকার কমিটি গঠন করা হয়। এ সময় মুরাদনগর উপজেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া সনাতন ধর্মের মৃতদেহ সৎকার করার জন্য প্রশিক্ষণসহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী প্রস্তুত করা হয়। জানা যায়, মহামারী করোনা ভাইরাসে ইতিপূর্বে মুরাদনগর উপজেলায় কয়েকজন সনাতন ধর্মাবলম্বীর মৃত্যু হয়। এরইমধ্যে স্বজনদের উদ্যোগে মৃতদের  সৎকারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন না করায় বিষয়টি নিয়ে শুক্রবার রহিমপুর অযাচক আশ্রমে পরামর্শ সভার আয়োজন করা হয়।

এ সময় অযাচক আশ্রমের ব্যবস্থাপনায় এবং পূজা উদযাপন পরিষদ মুরাদনগর উপজেলা শাখার সার্বিক সহযোগিতায় একটি সৎকার কমিটি গঠন করা হয়। এতে অযাচক আশ্রম বাংলাদেশ প্রধান এবং সাদা মনের মানুষ খ্যাত ডাঃ যুগল ব্রহ্মচারীকে আহ্বায়ক করে ১০ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন যুগ্ম-আহ্বায়ক অধ্যাপক নিত্যানন্দ রায়, বাবু পার্থসারথী দত্ত, সমন্বয়কারী বিষ্ণুপদ সাহা, শংকর রায়, সদস্য-সচিব রামপ্রসাদ দেব, সদস্য অধ্যক্ষ গৌরাঙ্গ চন্দ্র পোদ্দার, অধ্যক্ষ বিমল বিকাশ ভৌমিক, বিজন কুমার দাশ, শংকর লাল সাহা এবং অসিত বরণ সরকার শংকর। এতে আরো ৩০ জন স্বেচ্ছাসেবী করোনায় মৃতদেহ সৎকারে তালিকার নাম লিপিবদ্ধ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, মুরাদনগর উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বিজন কুমার দাস,ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক ও যুগ্মসাধারণ সম্পাদক পলাশ চন্দ্র দেবনাথ, পূজা উদযাপন পরিষদের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও কুমিল্লা উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের
আহ্বায়ক কমিটির সদস্য  অসিত বরণ সরকার শংকর প্রমুখ।

প্রতাপনগরে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা

প্রতাপনগরে ভ্রাম্যমান  আদালতে জরিমানা




আহসান  উল্লাহ  বাবলু, আশাশুনি,( সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর ইউনিয়নে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে জরিমানা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সচেতনমূলক প্রচার করা হয়। বৃহস্পতিবার এ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। 
করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রতাপনগর ইউনিয়নের তালতলা বাজারে দুপুর ১.৩০ টায় সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার জন্য ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মীর আলিফ রেজা। মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে মাস্ক না পরায় ও সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে দোকানে ভিড় করায় দুই দোকানদারকে জরিমানা করা হয়। এ সময় মাস্ক পরা ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার জন্য সবাইকে সচেতন করা হয়।

আশাশুনি উপজেলা জাতীয় পার্টির আলোচনা সভা

আশাশুনি উপজেলা জাতীয়  পার্টির আলোচনা সভা


  


আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি, (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ আশাশুনি উপজেলা জাতীয় পার্টির এক আলোচনা সভা ও যোগদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে দলীয় কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 
উপজেলা জাপা’র সভাপতি রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইয়াহিয়া ইকবালের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় সহ সভাপতি নুরুল হুদা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খালিদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল বাশার, সমাজ কল্যান সম্পাদক মোসলেম উদ্দীন, উপজেলা যুব সংহতির সভাপতি রফিকুল ইসলাম, শোভনালী ইউনিয়ন সভাপতি গোলাম মোস্তফা, সম্পাদক তুহিন গাজী, জাপা নেতা ইউনুছ আলী, মোসেল উদ্দীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। জাতীয় পার্টির নীতি ও আদর্শে বিশ^াসী হয়ে সভায় শোভনালী ইউনিয়নের এম এ হামিদ সরদারের পুত্র বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক এস এম মনিরুজ্জামান ডালিম সহ তার নের্তৃত্বে ২৫ ব্যক্তি উপজেলা জাপা’র নের্তৃবৃন্দের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেন। সভায় বর্তমান বৈশি^ক মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে দলীয় নেতা কর্মী সহ জনসাধারণকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সচেতন করা, সামজিক দূরত্ব বজায় রেখে আগামী ১৪ জুলাই জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচ এম এরশাদের ১ম মৃত্যু বার্ষিকী পালন করা সহ সাংগঠনিক বিষয়ে আলোচনা করা হয়।
শোভনালীতে ভার্সিটি 
ছাত্রের ইন্তেকাল
 
আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি, (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ আশাশুনি উপজেলার শোভনালীতে এক বিশ^বিদ্যালয় শিক্ষার্থী ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি অইন্না ইলায়হি রাজেউন)। 
শোভনালী ইউনিয়নের বাঁকড়া গ্রামের নূর ইসলাম সরদারের একমাত্র পুত্র তানভীর ইসলাম ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ে ইসলামের ইতিহাস বিভাগের ছাত্র ছিল। তুখোড় ফুটবলার ও মেধাবী ছাত্র তানভীর লিভার সিরোসিস এ ভুগছিল। বুধবার সে সাতক্ষীরার এ একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। বৃহস্পতিবার তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

মাধবপুরে রেড জোনে লকডাউনের প্রথম দিনে ২ ব্যক্তি ও ৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা,

মাধবপুরে রেড জোনে লকডাউনের প্রথম দিনে ২ ব্যক্তি ও ৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা,




 লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের মাধবপুর বাজারে বাসস্ট্যান্ড সহ বিভিন্ন জায়গাতে অভিযান চালিয়েছে উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ শুক্রবার (১৯ জুন) উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাসনুভা নাশতারান নেতৃত্বে বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালিত হয় এ সময় অযথা ঘোরাঘুরি দায়ে ২ ব্যক্তি ও,

সরকারি নিয়ম অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় ৬ দোকানিকে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। উপজেলা নির্বাহি অফিসার তাসনুভা নাশতারান বলেন, সরকারি আদেশ অমান্য করে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে যেমন মাস্কবিহীন অযথা রাস্তায় ঘোরাফেরা করার কারণে ২ ব্যক্তিকে মোট ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া সরকারি নিয়ম অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় ৬ দোকানিকে ৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় দণ্ডপ্রাপ্ত দোকানিদের ভবিষ্যতে এমন পরিস্থিতিতে দোকান খুলবেন না এই মর্মে সতর্ক করা হয়। এ ছাড়াও মাইকিংয়ের মাধ্যমে সবাইকে লকডাউনের বাধা নিষেধ মেনে চলার জন্যে সবাইকে অনুরোধ করা হয় বলেও জানান তিনি।

আশাশুনি টু সাতক্ষীরা সড়কের বেহাল দশায় জন দুর্ভোগ চরমে

আশাশুনি টু সাতক্ষীরা সড়কের বেহাল  দশায় জন দুর্ভোগ চরমে


 
 
আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি, (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ আশাশুনি টু সাতক্ষীরা এবং আশাশুনি টু কোলা ঘোলা সড়কের অবস্থা খুবই নাজুক হয়ে পড়েছে। রাস্তায় বড় বড় খাদের সৃষ্টি ও খোয়া উঠে ছড়িয়ে থাকায় সড়কটিতে চলাচাল খুবই বিপদজনক হয়ে পড়েছে। বৃষ্টির পানি রাস্তায় জমে সড়কের উপর জলাশয়ের মত চিত্র বিরাজ করছে। 
দীর্ঘকালের অবহেলার কারণে সড়কটি এলাকাবাসীর জন্য অভিশাপ হিসাবে দেখা দিয়েছিল। অনেক দেন দরবরার ও প্রচেষ্টার ফসল হিসাবে অবহেলিত সড়কটি সংস্কারের জন্য প্রায় ৭৭ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়। ২০১৯ সালে সড়কের কাজ শুরু করা হয় এবং কাজ দ্রুত গতিতেই এগিয়ে চলছিল। করোনার প্রাদূর্ভাব সংস্কার কাজের মাঝ পথে এসে হঠাৎ করে কাজ বন্দ হয়ে যায়। গুরুত্বপূর্ণ সড়কে যানবাহন চলাচল ও বৃষ্টির পানিতে সড়কের পাথর ও বালি উঠে সড়কের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে ছোট বড় খানা খন্দক। এতে পানি জমে সড়কটিকে করে তুলেছে বিপদজনক। চাকার ধাক্কায় সড়কের খাদের পানি ছিটকে অন্য যানবাহন, পথচারী ও দোকান পাটে কর্দমাক্ত পানিতে প্রতি নিয়ত একাকার হয়ে যাচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে সড়কটি পূর্বের থেকেও আরও চরম বিপদজনক হয়ে উঠবে।  
সড়কের একাধিক মিনিবাস চালক জানান, সড়কের মধ্যে অসংখ্য খানাখন্দকের সাথে যুদ্ধ করে ঝুঁকি নিয়ে তাদেরকে যানবাহন চালাতে হয়। প্রতিদিনই কোন না কোন যানবাহন বিকল হয়ে সড়কের মধ্যে পড়ে থাকে। আর সড়কের মধ্যে যানবাহন বিকল হওয়ায় ভোগান্তি বেড়ে যায় চলাচলরত সাধারণ যাত্রীদের। বুধহাটা বাজারের হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী আব্দুল কাদের বলেন, বর্ষার পানি সড়কের মধ্যে গর্তে জমে থাকায় গাড়ির চাকার ধাক্কায় ময়লা পানিতে তাদের দোকান ও ক্রেতাদের পোষাক নোংরা করে দিচ্ছে। এব্যাপারে সাতক্ষীরা সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মীর নিজামউদ্দীন সাংবাদিকদের বলেন, পোর্ট বন্দ থাকার কারণে আমরা পাথর আমদানি করতে পারছি না। তবে সড়কটি চলাচলের উপযোগী করে রাখতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বর্ষা মৌসুম শেষে পুনরায় সংস্কার কাজ শুরু হবে বলে তিনি জানান।

তিন মাস আটকে রেখে ধর্ষণ!

তিন মাস আটকে রেখে ধর্ষণ!





মিঠুন কুমার রাজ, 
পিরোজপুর জেলা প্রতিনিধি। 

 বরিশালের আগৈলঝাড়ায় এক কিশোরীকে (১৫) অপহরণের পর তিন মাস আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় অভিযুক্ত এক নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৯ জুন) দুপুরে অভিযুক্ত আকলিমা বেগমকে আদালতের মাধ্যমে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। অন্যদিকে ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীকে চিকিৎসার জন্য শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নির্যাতনের শিকার ওই কিশোরীর বোন বৃহস্পতিবার রাতে বাদী হয়ে ওই নারীসহ চার জনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলার অপর আসামিরা হলো, পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর থানার মাটিভাঙ্গা গ্রামের সহিদ শেখ ওরফে সুমন, একই থানার মাহমুদকান্দি গ্রামের সরোয়ার ফরাজীর ছেলে রেজাউল ফরাজী এবং আকলিমার স্বামী সাহিদ শেখ।

মামলার বাদী বলেন, মায়ের মৃত্যুর পর ছোট বোনকে নিয়ে তারা দাদার বাড়িতে থাকতেন। বাবা ঢাকায় কাজ করতেন। দাদা-দাদি মারা যাওয়ার পরে তাদের বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করে ঢাকায় বাসা নেন। বাবা ঢাকায় থাকার কারণে ছোট বোনকে বাড়িতে ফুফু সম্পর্কের আকলিমাকে দেখাশোনার জন্য বলেন। বাড়িতে আকলিমার ভাসুর সুমনসহ পরিবারের অন্যান্য স্বজনরা যাতায়াত করতো। সেই সুবাদে আসামিদের সঙ্গে আমার বোনের পরিচয় ছিল। সেই সূত্র ধরে গত ১৬ মার্চ সন্ধ্যায় সুমন মোবাইলে আমার বোনকে বাড়ির পাশে রাস্তার ওপর দেখা করতে বলে। সেখান থেকেই পূর্ব পরিকল্পিতভাবে সুমন, রেজাউল ফরাজী, আকলিমা বেগমসহ অজ্ঞাতনামা দুই থেকে তিন জন মিলে আমার বোনকে অপহরণ করে। এরপর মোটরসাইকেলে করে পিরোজপুরে নিয়ে সুমনের বাড়িতে আটকে রাখে।

তিনি আরও বলেন, গত ১৭ মার্চ রাতে সুমন জোরপূর্বক আমার বোনকে ধর্ষণ করে। এরপরে প্রায় তিন মাস বাড়িতে আটকে রেখে অব্যাহতভাবে ধর্ষণ করে। গত ১০ জুন কৌশলে সেখান থেকে পালিয়ে বাড়িতে এসে এ ঘটনা জানায় আমার বোন। এরপরই এই মামলা করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) তৈয়বুর রহমান জানান, অভিযোগ পেয়ে ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে ধর্ষণে সহায়তাকারী আকলিমা বেগমকে গ্রেফতার করা হয়। অপর আসামিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সিঙ্গাপুরিয়ানদের কোভিড-১৯ পরীক্ষা ছাড়াই মালয়েশিয়ায় প্রবেশের অনুমতি দেওয়া যেতে পারে

সিঙ্গাপুরিয়ানদের কোভিড-১৯ পরীক্ষা ছাড়াই মালয়েশিয়ায় প্রবেশের অনুমতি দেওয়া যেতে পারে





নাঈম শেখ সিঙ্গাপুর প্রতিনিধিঃ 
শুক্রবার ১৯ জুন পুত্রজায়া থেকে বলা হয়েছে, সিঙ্গাপুরের স্থানীয় নাগরিকরা কোভিড-১৯ স্ক্রিনিং এবং হোম কোয়ারানটাইন ছাড়াই মালয়েশিয়ায় প্রবেশের অনুমতি দেওয়া যেতে পারে৷ তবে মালয়েশিয়ানদের জন্যও একই ব্যবস্থা থাকা উচিত৷ 
কোভিড -১৯ এর পদক্ষেপের বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনের সময় প্রবীণ মন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকোব বলেছেন যে, মালয়েশিয়ার সরকার সিঙ্গাপুর ও ব্রুনাই উভর দেশের নাগরিকদের মালয়েশিয়া প্রবেশের অনুমতি দিবে। তবে মালয়েশিয়ানদের ক্ষেত্রে একই নমনীয়তা প্রসারিত করা উচিত৷ 
প্রতিরক্ষামন্ত্রী মিঃ ইসমাইল সাবরী বলেছিলেন যে সিঙ্গাপুর এবং ব্রুনাই উভয়কেই মালয়েশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় সবুজ অঞ্চল হিসাবে চিহ্নিত করেছে।

“আমরা সিঙ্গাপুরে বসবাসকারী সিঙ্গাপুরের নাগরিকদের বা ব্রুনাইতে বসবাসকারী ব্রুনাইয়ের নাগরিকদের আমাদের দেশে আসতে দেওয়ার বিষয়ে একমত হয়েছি। তাই, আমরা আমাদের দেশে সিঙ্গাপুরের নাগরিক এবং ব্রুনাইয়ের নাগরিকদের জন্য আমাদের ইমিগ্রেশন বিভাগের অনুমোদনের প্রয়োজন ছাড়াই বা কোভিড -১৯ স্ক্রিনিং টেস্ট বা হোম কোয়ারানটাইন পাস করার জন্য উন্মুক্ত করছি৷ 

তবে তিনি উল্লেখ করেছিলেন যে, মালয়েশিয়ানরাও এই একই সুযোগের ব্যবস্থা করবে এই শর্তে।
মিঃ ইসমাইল সাবরি বলেছেন, সীমান্ত বিধিনিষেধকে শিথিল করা উচিত এবং এই উভয় দেশকে অবশ্যই আমাদের নাগরিকদের কোনও বিধিনিষেধ ছাড়াই প্রবেশ করতে দেওয়া উচিত, যেমনটি আমরা অনুমতি দিয়েছি। 

সিঙ্গাপুরের ক্ষেত্রে তিনি জোর দিয়েছিলেন যে সিদ্ধান্তটি উভয় পক্ষের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্যে আলোচনার ফলাফলের উপর নির্ভরশীল।

“সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ নিয়ে আলোচনা করছে। তারা এখনও আলোচনা করছে ... যদি তারা আমাদের পরামর্শগুলিতে সম্মত হয় তবে আমরা বিধিনিষেধ শিথিল করতে এবং আমাদের সীমানা খুলতে সম্মত হব। সুতরাং আমাদের অপেক্ষা করতে হবে৷

মরহুম নাসিম স্বরণে বেজগাঁতীতে কোরআন খতম ও দোয়া মাহফিল

মরহুম নাসিম স্বরণে বেজগাঁতীতে কোরআন খতম ও দোয়া মাহফিল



মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ 
বাগবাটী আওয়ামী যুবলীগের
উদ্যোগে সাবেক স্বাস্থ্য মন্ত্রী মরহুম মোহাম্মদ নাসিম স্বরণে কোরআন
খতম ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত
হয়েছে।
শুক্রবার বাদ মাগরিব বেজগাঁতী
দলীয় কার্যালয়ে ৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো.কামাল হোসেন  এর সভাপতিত্বে মরহুম মোহাম্মদ নাসিমের বিদেহী আত্নার
শান্তি কামনায় এ কসরআন খতম ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
এ সময় মুনসুর নগর থানা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মো. আমজাদ হোসেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের. সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম.সিনিয়র সহসভাপতি শাহ আলম.যুবলীগের সভাপতি মনজুর মোর্শেদ সজল. ইউপি সদস্য আলহাজ নরনবী ৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সহসভাপতি রহম আলী.প্রিন্সিপাল মাসুদ. ইউনিয়ন আওয়ালীগ যুবলীগ ছাত্রলীগ কৃষকলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের সকল নেতাকর্মি উপস্থিত ছিলেন।

ঝিনাইদহ পুলিশের চেকপোষ্ট দেখে মোটরসাইকেল ও ৬ কেজি রুপা ফেলে পালিয়ে গেল পাচারকারী

ঝিনাইদহ পুলিশের চেকপোষ্ট দেখে মোটরসাইকেল ও ৬ কেজি রুপা ফেলে পালিয়ে গেল পাচারকারী





খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 



ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার জনাব মো: হাসানুজ্জামান পিপিএম এর নির্দ্দেশে কোটচাঁদপুর-মহেশপুর সড়কের জগন্নাথপুর তিন রাস্তার মোড়ে চেকপোষ্ট বসায় ডিবি পুলিশ। পুলিশের চেকপোষ্ট দেখে পাচারকারির ফেলে যাওয়া একটি মোটর সাইকেল ও ৬ কেজি রুপা উদ্ধার করা হয়। কোটচাঁদপুর-মহেশপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: মোহাইমিনুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সড়কের জগন্নাথপুর তিন রাস্তার মোড়ে যাত্রী ছাউনির সামনে চেকপোষ্ট বসানো হয়। সেসময় বেশকিছু বাস ও মোটরসাইকেল থামিয়ে তল্লাসী করা হচ্ছিল। এক পর্যাযে একটি মোটরসাইকেল ফেলে রেখে একজন আখক্ষেতের ভিতর দিয়ে পালিয়ে যায়। পিছু পিছু ধাওয়া করে তাকে আর পাওয়া যায়না। তার মোটরসাইকেলের সিটের নিচে থাকা একটি ব্যাগ থেকে ৬ কেজি রুপা পাওয়া যায়। ধারণা করা হচ্ছে, পাচারের উদ্দেশ্যে রুপাগুলি নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। উল্লেখ্য, গত ১৭ জুন ঝিনাইদহ শহরের ভেটেনারী কলেজের সামনে চেকপোষ্ট বসিয়ে পুলিশ ৬ কেজি ৭’শ গ্রাম রুপা ও ২২ লাখ টাকাসহ ২ পাচারকারীকে গ্রেফতার করে।

সংকটে নোবিপ্রবি শিক্ষার্থীরাঃ প্রাসঙ্গিক ভাবনা

সংকটে নোবিপ্রবি শিক্ষার্থীরাঃ প্রাসঙ্গিক ভাবনা




এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান

 কিছুদিন যাবৎ নোবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ফেসবুক স্টাটাসগুলো এই করোনা কালীন সময়ে মেসভাড়া সংক্রান্ত বিষয়। এই বন্ধের সময় মেসের মালিকরা ফোন করে শিক্ষার্থীদের কাছে মেস ভাড়া চাচ্ছে। ফলে শিক্ষার্থীদের পড়তে হচ্ছে বিপাকে। শুনেছি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও নোয়াখালী স্থানীয় প্রশাসনও নাকি এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।কিন্তু  এ পদক্ষেপ কতোটা কার্যকর করা হয়েছে সেটা বলতে পারছি না।
আমরা জানি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থী নিম্ন মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের। আবার অনেকে আছে দিন আনে  দিন খায়ে তাদের ছেলেমেয়েদের  বিশ্ববিদ্যালয় পড়াচ্ছেন। এসব ফ্যামিলির ছেলেমেয়েরা নিজে টিউশনি করে নিজে খরচ তো চালাতো বটেই এমনি পরিবারকে টাকা পাঠাতো।কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার জন্য শিক্ষার্থীদের একমাত্র আয়ের উৎসটাও বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে বিপাকে পড়ে গেছে এসব শিক্ষার্থীরা। 
ইতিমধ্যে নোবিপ্রবির অধিকাংশ শিক্ষক ব্যক্তিগতভাবে নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী এসব  অসহায় শিক্ষার্থীদের পাশে এসে দাড়িয়েছে। আমি  মনেকরি নোবিপ্রবি প্রশাসনেরও উচিত তাদের শিক্ষার্থীদের পাশে দাড়ানো। এ ক্ষেত্রে আমার কিছু ব্যক্তিগত অভিমত আছে।যেহেতু এখন বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রয়েছে সেহেতু.... 
১.যে সব শিক্ষকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়িতে যাতায়াত করেন এ জন্য তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কে দিতে হয়েছে প্রতিমাসে ৪০০ টাকা।কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার কারনে শিক্ষকদের গাড়ি বন্ধ রয়েছে। গাড়ি বন্ধ থাকলেও গাড়ি ভাড়া প্রতিমাসে কেটে নেওয়া হচ্ছে। প্রায় ২০০ জন টিচার(কম বেশি হতে পারে) গাড়িতে যাতায়াত করে।প্রতিমাসে গাড়ি ভাড়া বাবদ আসে 
              ২০০*৪০০=৮০০০০ টাকা
২.বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রশাসনিক দাঁয়িত্বে আছেন(কিছু পোস্ট বাদে)প্রায় ১০০ শিক্ষক (বেশিও হতে পারে)।এখন যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ এ জন্য তাদের দায়িত্বও পালন করতে হচ্ছে না। দায়ীত্ব পালনের জন্য প্রত্যেকে প্রতিমাসে অনারিয়ম দেওয়া হচ্ছে ৩৫০০ টাকা।তাতে মোট আসে
              ৩৫০০*১০০=৩৫০০০০ টাকা
৩.নোবিপ্রবি তে ২৮ টি ডিপার্টমেন্ট ও ২ টি ইনস্টিটিউট কে প্রতিমাসে ইমপ্রেস মানি বাবদ দেওয়া হতো ৩০০০ টাকা করে।যদিও এর মধ্যে ভ্যাট রয়েছে। ভ্যাট ছাড়া থাকে ২৫০০ টাকার মতো।এ থেকে মোট আসে 
           ২৫০০*৩০=৭৫০০০ টাকা।
মোটা টাকা হয় (৮০০০০+৩৫০০০০+৭৫০০০)
                       =৫০৫০০০ টাকা।
এছাড়াও ছাত্রকল্যাণ তহবিলেও রয়েছে অনেক টাকা।প্রতিমাসে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বাস ভাড়া বাবদও নিচ্ছে টাকা।
প্রতিমাসে এ টাকাটা নোবিপ্রবি প্রশাসন অসহায় শিক্ষার্থীদের পিছনে ব্যয় করতে পারে।এতে করে কিছুটা হলেও অসহায় শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবে।কারণ শিক্ষার্থীরাই আমাদের প্রাণ। নোবিপ্রবি প্রশাসন ভেবে দেখতে পারেন।


লেখক: 
সহকারী অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান 
বাংলাদেশ এন্ড লিবারেশন ওয়ার স্টাডিজ বিভাগ 
নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

মুরাদনগরে ৭ পুলিশ কর্মকর্তাসহ মোট ১৮ জনের করোনা শনাক্ত

মুরাদনগরে ৭ পুলিশ কর্মকর্তাসহ মোট ১৮ জনের করোনা শনাক্ত




কুমিল্লা উত্তর জেলা প্রতিনিধি


কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় নতুন করে আরো ১৮জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে মুরাদনগর থানার ৭ পুলিশ সদস্য রয়েছেন।

বাকি ১১জন হলেন উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ বাজারের প্রাইম ব্যাংকের কর্মকর্তা ১জন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের ১জন, কামাল্লা গ্রামের গ্রাম পুলিশ ১জন, উপজেলা সদর এলাকায় ভাড়াটিয়া ১জন, বাবুটিপাড়া ইউনিয়নের লাজৈর গ্রামের ১জন, রহিমপুর গ্রামের ১জন, স্বাস্থ্যকর্মী ৪জন ও গত বৃহস্পতিবার করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করা ভবানীপুর গ্রামের ১জন মহিলা।

বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ড. সিরাজুল ইসলাম মানিক বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এনিয়ে পুরো উপজেলায় এখন পর্যন্ত সর্বমোট করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২০৩জন। এদের মধ্যে ১জন চিৎসক, ২৩জন স্বাস্থ্যকর্মী ও ১জন স্বেচ্ছাসেবক ল্যাব টেকনেশিয়ান রয়েছে। অপরদিকে এ উপজেলা সর্বমোট করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছে ১২০জন।

পশ্চিম বাকলিয়া এলাকায় রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের উপহার বিতরণ

পশ্চিম বাকলিয়া এলাকায় রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের উপহার বিতরণ




রিয়াজুল করিম রিজভী প্রতিনিধি চট্টগ্রাম

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি চট্টগ্রাম জেলা ও সিটি ইউনিটের সহযোগীতায় যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের বাস্তবায়নে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য ও চট্টগ্রাম জেলা ইউনিটের ভাইস চেয়ারম্যান ডাঃ শেখ শফিউল আজম ও চট্টগ্রাম সিটি ইউনিটের ভাইস চেয়ারম্যান এম.এ. ছালামের তত্ত্বাবধাণে করোনা কালীন সময়ে ১৭ নং ওয়ার্ড পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ডের কর্মহীন হয়ে থাকা জনসাধারণের কাছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ১০ দিনের খাদ্য সামগ্রী উপহার স্বরূপ বিতরণ করা হয়। যুব রেড ক্রিসেন্ট, চট্টগ্রামের যুব প্রধান মোঃ ইসমাইল হক চৌধুরী ফয়সালের নেতৃত্বে উক্ত কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের সিনিয়র যুব সদস্য জ্যোতির্ময় ধর, রক্ত বিভাগীয় উপ প্রধান ইস্তাকুল ইসলাম চৌধুরী, একেএম তরিকুল ইসলাম রানা, ডা: ছোটন বৈদ্য, তাজুন তাহিম ফারুক  প্রমুখ। 
উপহার বিতরণের সময় যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের স্বেচ্ছাসেবকরা এলাকাবাসীকে অযথা ঘর থেকে বের না হওয়ার জন্য এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার সচেতনা বার্তা প্রদান করেন।

আশাশুনিতে এসিল্যান্ডের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ

আশাশুনিতে এসিল্যান্ডের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ
আশাশুনিতে এসিল্যান্ড'র হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধসহ মেয়ের বাবাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায়






আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি, (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ

 আশাশুনিতে এসিল্যান্ড'র হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ করাসহ মেয়ের বাবাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। শুক্রবার বিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিব ম্যাজিস্ট্রেট শাহীন সুলতানার হস্তক্ষেপে দরগাহপুর ইউনিয়নের শ্রীধরপুর গ্রামের আবুল কালাম সরদারের কন্যা সামিরা খাতুন (১৫) কে বাল্যবিবাহের হাত থেকে মুক্ত করা হয়। এবং মেয়ের বাবাকে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ এর ৮ ধারায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ১৮ বছর পূর্তি না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে দেবে না বলে লিখিত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন। এসময় পুলিশ সদস্য, ইউপি সদস্য, (ভূমি) অফিসের নাজির সুগত অধিকারী উপস্থিত ছিলেন।

জবিতে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

জবিতে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি





জবি প্রতিনিধিঃ
"মুজিবর্ষের আহবান, ৩ টি করে গাছ লাগান" কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়(জবি) শাখা ছাত্রলীগের কর্মীরা।



শুক্রবার (১৯জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ে মুজিব শতবর্ষে ১ কোটি বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করেন।



জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক উপ-মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক নাহিদ পারভেজের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের কর্মীরা এই কর্মসূচি পালন করেন। এতে আরো অংশগ্রহণ করেন ছাত্রলীগ কর্মী মোহসিনুর মুরাদ, শাহিনুর শাহিন, নাঈমুল ইসলাম সৈকত।



বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক উপ-মুক্তি বিষয়ক সম্পাদক নাহিদ পারভেজ বলেন,  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে দেশরত্ন শেখ হাসিনার ১ কোটি বৃক্ষরোপন কর্মসূচিকে স্বাগত জানাই। এই মহৎ কাজ জননেত্রী শেখ হাসিনার মাধ্যমেই সম্ভব। জননেত্রীর নির্দেশে মুজিব বর্ষের আহবান, ৩ টি করে গাছ লাগান কর্মসূচিসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নের লক্ষ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ অতীতেও ছিল, এখন আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।



তিনি আরো বলেন, গাছ আমাদের বন্ধু। আমাদের বিপদে-আপদে সর্বদা পাশে থেকে পরিবেশ রক্ষা করে আসছে। মুজিব শত বর্ষে ১কোটি গাছ লাগালে পরিবেশ ভালো থাকবে, আমরাও ভালো থাকবো।

নাটোরের বড়াইগ্রামে চতুর্ভূজ পরকীয়া প্রেমের বলি কৃষক মোবারক

নাটোরের বড়াইগ্রামে চতুর্ভূজ পরকীয়া প্রেমের বলি কৃষক মোবারক




রাজশাহী ব্যুরো:
নাটোরের বড়াইগ্রামের ইকোরি গ্রামের প্রেমের ফাঁদে ফেলে পরকীয়া করে স্বার্থ আদায়কারী আরিফা বেগমের চতুর্ভূজ পরকীয়া প্রেমের বলি কৃষক মোবারক।

 আলোচিত ওই নারীকে গ্রেফতারের পরই উন্মোচিত হয়েছে মোবারক হত্যাকান্ডের মূল রহস্য।

 পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে অন্য পরকীয়ার প্রেমিকদের সাথে একত্র হয়ে মোবারককে হত্যা করে আরিফা। 

এ ঘটনায় মোবারক পরপারে পাড়ি জমালেও পরকীয়ার বাকি ৩ প্রেমিক এখন আরিফার সাথে হাজতবাসে।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংএ এই তথ্য জানান পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা।

তিনি জানান, আরিফার চতুর্ভুজ প্রেমের দ্বন্দ্বে খুন হয়েছেন কৃষক মোবারক। গত ১৫ জুন বিকেলে উপজেলার ইকোরী বিলে গরু চড়াতে গেলে তারই তিন বন্ধু রশিদ, জিহাদ, আসাদুল এবং প্রেমিকা আরিফা মিলে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পাটের জমিতে ফেলে রাখে। 

পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার ও ওই দিনই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পরে ১৬ জুন নিহতের স্ত্রী রানী বেগম অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করলে পুলিশ তদন্ত শুরু করে। তদন্তের এক পর্যায়ে পুলিশ চাঞ্চল্যকর ও লোমহর্ষক এই হত্যাকান্ডের আসামিদের ধরতে ৯ জনকে আটক করে। পরে জিজ্ঞাবাদে ঘটনার পরিকল্পনাকারী আরিফাসহ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করে।

 এর মধ্যে আরিফা, আসাদুল ও রসিদ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে। আর জিহাদ ও পুলিশের কাছে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে অনুশোচনায় ভুগছেন। তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেবেন বলে জানান পুলিশ সুপার।

পুলিশ জানায়, ইকোরি গ্রামের বৃদ্ধ কাচু খার যুবতী স্ত্রী আরিফা। স্বামীর অক্ষমতায় এলাকার যুবক ও পুরুষদের সাথে পরকীয়া প্রেম করে অর্থ উপায়েরও একটি পথ বেছে নেয়। একদিন মোবারক অন্য পুরুষের সাথে আরিফা আপত্তিবর অবস্থায় দেখে তা তার স্বামীকে জানিয়ে দেয়। বিষয়টি শুনে আরিফার স্বামী হাতে নাতে আরিফাকে ধরে ফেলে। এরপর থেকেই মোবারকের প্রতি প্রতিশোধ নেয়ার সুযোগ খোজে আরিফা। এই ফাঁদে ধরা দেয় মোবারকও। এর মধ্যেই অন্যদের সাথে মোবারককে শায়েস্তা করার পরিকল্পনা করে আরিফা। তারই জেরে ১৫ জুন মোবারকের সাথে শারিরিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রলোভনে নির্জনে দেখা করতে পাটের ক্ষেতে ডাকে আরিফা। সেখানে গিয়ে সে পরিকল্পনায় জড়িতদের মোবাইলে মিস কল দেয়। তার ইঙ্গিত পেয়ে সেখানে উৎপেতে থাকে রসিদ, জাহিদ ও আসাদুলও সেখানে উপস্থিত হয়। 

প্রথমে রশিদসহ অন্যরা পাটের জমিতে পাট দিয়ে মোবারকের হাত পা পেছন থেকে বেঁধে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এসময় মোবারক উঠে যাওয়ার চেষ্টা করে মাটিতে পড়ে গেলে আরিফা মুখ ধরে রাখে। এ সময় মোবারক উপুর হয়ে পড়ে গেলে আসাদুল ও জিহাদ শরীরের উপর চেপে বসে রশিদ পা ধরে রাখে। 

এ সময় আরিফা নিজে ও আসাদুল মিলে মাটির মধ্যে মোবারকের মুখ চেপে ধরে রেখে মৃত্যু নিশ্চিত করে।

একজন মেয়ের এমন নির্দয়তায় পুলিশ প্রশাসনসহ সকলেই আৎকে উঠেছেন।
এ ঘটনার পর জড়িতদের দৃষ্ট্রান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছেন এলাকাবাসী।

তালার পল্লিতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে বৃদ্ধার মৃত্যু

তালার পল্লিতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে বৃদ্ধার মৃত্যু



আজহারুল ইসলাম সাদী, জেলা প্রতিনিধিঃ
সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার
৮নং মাগুরা ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড এর মাগুরাডাঙা গ্রামের জগদীশ মণ্ডলের স্ত্রী সীতা মন্ডল (৬০) আজ ১৯ জুন শুক্রবার, বিকাল ৪ টার সময় নিজ বাড়িতে অসাবধানতা বসত বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু বরণ করেছেন।
স্থানীয় ইউপি সদস্য মইনুল ইসলাম জানান আমার ৬ নাম্বার ওয়ার্ডের সব চাইতে দুস্থ পরিবারের মানুষ এই পরিবার। তিনি মৃত্যু আত্মার শান্তি কামনা করেছেন।

চট্টগ্রাম হত্যার আট ঘন্টার মধ্যে আসামী গ্রেপ্তার!

চট্টগ্রাম হত্যার আট ঘন্টার মধ্যে আসামী গ্রেপ্তার!




 মোঃ হাসান রিফাত ইপিজেড প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম  ইপিজেড থানা কর্তৃক হত্যাকান্ডের ০৮ ঘন্টার মধ্যে রহস্য উদ্ঘাটন ও হত্যাকারীকে গ্রেফতার করেন পুলিশ,
গত ১৭/০৬/২০২০ ইং তারিখে সকাল অনুমানিক ১০.৩০ ঘটিকার সময় সংবাদ পাওয়া যায় যে, ইপিজেড থানাধীন সিমেন্ট ক্রসিং কাঁচা বাজার রোডস্থ আবুল কালাম লন্ডনীর বাড়ীর ২য় তলায় একজন মহিলাকে অজ্ঞাতনামা দুবৃত্তরা হত্যা করিয়াছে।
উক্ত সংবাদের বিষয়টি উপ-পুলিশ কমিশনার (বন্দর), সিএমপি, চট্টগ্রাম জনাব হামিদুল আলম, বিপিএম, পিপিএম, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (বন্দর), সিএমপি, চট্টগ্রাম জনাব আরেফিন জুয়েল, সহকারী পুলিশ কমিশনার (বন্দর), সিএমপি, চট্টগ্রাম জনাব মোঃ কামরুল হাসান মহোদয়দের অবগত করিয়া ইপিজেড থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মীর মোঃ নূরুল হুদা এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে তাৎক্ষনিকভাবে ইপিজেড থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জনাব মোহাম্মদ হোছাইন এর নেতৃত্বে এসআই/ টিটু নাথ, এসআই/ মোঃ জিল্লুর রহমান, এসআই/ মোঃ আবু সাঈদ, এএসআই/ মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, এএসআই/ মোঃ হান্নান হোসেন, এএসআই/ মোঃ হান্নান উদ্দিন’দের সমন্বয়ে একটি চৌকশ টিম গঠন করা হয়।
উক্ত টিম ইপিজেডের অফিসারগণ উক্ত হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনের জন্য দ্রুতগতিতে মাঠে নেমে পড়ে, টিম ইপিজেড উক্ত হত্যাকান্ডের রহস্য উদ্ঘাটন করতে একটু বেগ পেতে হলেও টিম ইপিজেড হতাশাগ্রস্থ না হয়ে ঘটনার পেছনে ছুটতে থাকে।
 তাহারই ধারাবাহিকতায় আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ও পুলিশিং কলাকৌশল অবলম্বন করে অফিসার ইনচার্জ এর নির্দেশে টিম ইপিজেড এর অফিসার ডাক্তারের ছদ্মবেশ ধারণ করিয়া তাহার টিমের অধীনস্থ অফিসারদের বিভিন্ন ছদ্মবেশে সম্ভাব্য সকল স্থানে মোতায়েন করিয়া অতি দ্রুত সময়ে ঘটনায় জড়িত মাস্টারমাইন্ড হত্যাকারী পলাতক আসামী মোঃ সোহাগ হাওলাদার (২২), পিতা-মোঃ খালেক হাওলাদার, মাতা-মনিরা বেগম, সাং-মল্লিকের বেড়, হাওলাদার বাড়ী, ডাকঘর-মল্লিকের বেড়, থানা-রামপাল, জেলা-বাগেরহাটকে গ্রেফতার করিতে সক্ষম হয়।
প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়, পূর্ব পরিকল্পিতভাবে স্বামী-স্ত্রীর বিরূপ সম্পর্কের জের ধরিয়া ক্ষোভের বশবর্তী হইয়া শ্বাশুড়ীর বাসায় কেউ না থাকার সুযোগে ১৭/০৬/২০২০ ইং তারিখ সকাল বেলা ভারী বর্ষণের সময় হত্যাকারী সঙ্গোপনে বাসায় প্রবেশ করিয়া নিহত মারিয়া আক্তার মালাকে (২০)’কে শ্বাসরুদ্ধ করিয়া হত্যা করিয়া গোপনে পালিয়ে যায় যাহাতে তাহার শ্বাশুড়ীসহ অন্য লোকজন ধারণা করে যে, অজ্ঞতনামা কেউ অজ্ঞাত কারণে নিহত মারিয়া আক্তার মালাকে হত্যা করিয়াছে, কিন্তু টিম ইপিজেড আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ঘাতকের পেছনে ছুটতে ছুটতে ঘটনায় জড়িত মাস্টারমাইন্ড আসামীকে ধৃত করিতে সক্ষম হয়।
উক্ত আসামীকে নিবিড়ভাবে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে সে ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার নিমিত্তে গোপনে শ্বশুড়ালয়ে গিয়ে মারিয়া আক্তার মালাকে মুখ ও গলা চাপিয়া ধরিয়া শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করিয়া গোপনে পালিয়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করে এবং মাননীয় আদালতে দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে,বর্তমানে  মামলাটি তদন্ত অব্যাহ আছে।

দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজ এর শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি অসুস্থ ,দোয়া কামনা

দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজ এর শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি অসুস্থ ,দোয়া কামনা




স্টাফ রিপোর্টার : ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলা প্রতিনিধি সম্রাট হোসেন দারুন ভাবে চোখের অসুখে ভুগছেন। জানা যায় আজ দুইদিন যাবত হঠাৎ করে চোখের যন্ত্রণা ও লালচে চিহ্ন দেখা দিয়েছে যে কারণে তিনি অসুস্থ হয়ে নিজ বাসায় অবস্থান করছেন। তার দ্রুত সুস্থতা কামনা করে দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়ে বিবৃতি প্রদান করেছেন দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজের সম্পাদক ও প্রকাশক মো: মহসীন আলী (প্রভাষক) ও দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজ এর সকল সাংবাদিক ও কর্মচারীবৃন্দ।

ঝিনাইদাহে সাপের কামড়ে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রের মৃত্যু!

ঝিনাইদাহে সাপের কামড়ে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রের মৃত্যু!



স্টাফ রিপোর্টাঃ   
ঝিনাইদহ সদর উপজেলা হলিধানি ইউনিয়নের  সোনার দাড় গ্রামের সোহেল নামের কলেজ পড়ুয়া (১৯) এক ছেলে সাপের কামড়ে মারা গেছে। ১৮ জুন  দিবাগত রাত ৩ টার সময় পুকুরের পাড় থেকে সাপে কামড়ায়। সকাল ১০ টার সময় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে মূমুষূ অবস্থায় আনা হয়।আনার পর তাকে অক্সিজেন   দেওয়া হলেও অবস্থার অবনতি হতেই থাকে।সদর হাসপাতাল থেকে তাকে অতিদূরত্ব কুষ্টিয়া মান্নান হার্ট ফাউন্ডেশন আনা হলে সেখানে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে থাকা অবস্থায় দুপুর ১টার দিকে মারা যায়। সকালে  হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে  খবর নিয়ে জানতে পারি সাপে কামড় দেওয়ার প্রয় ৬ ঘন্টা পর তাকে জেলা হাসপাতালে আনা হয়।তখন আর তাদের কিছুই করার ছিলো না বলে প্রতিবেদককে জানায়৷

মাকে বাঁচাতে জবি শিক্ষার্থীর আকুতি!

মাকে বাঁচাতে জবি শিক্ষার্থীর আকুতি!





জবি প্রতিনিধিঃ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) এর সংগীত বিভাগের ১৫ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মোস্তাকিম সরকার এর মা GBs (Guillain-Barre syndrome) রোগে আক্রান্ত। তার মায়ের জীবন বিপন্ন হওয়ার পথে। চিকিৎসার জন্য প্রায় ৮-৯ লক্ষ টাকার প্রয়োজন। পরিবারের অর্থনৈতিক সংকট থাকায় প্রায় ২ লক্ষ টাকার চিকিৎসা করার পর এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছেন তিনি এবং তার পরিবার।


পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, মোস্তাকিম সরকার ঢাকায় টিউশনি করে চলেন। তাদের ৫ সদস্যবিশিষ্ট পরিবার। বড় ভাই ঢাকা তেজগাঁও কলেজে পড়াশুনা করেন এবং ছোট ভাই পলিটেকনিকেল এর দশম শ্রেণির ছাত্র। তার বাবা একজন কৃষক। তাদের বাবা সংসার চালান। বাড়িতে ১ বিঘা আবাদি জমি আছে। তার বাবার জমানো টাকা ৫০,০০০ ছিল। তার মামারা কিছু সাহায্য করেন এবং আত্মীয় স্বজনদের থেকে কিছু টাকা পাওয়া গিয়েছে। তারপর থেকে এ পর্যন্ত ধার করে চিকিৎসা খরচ প্রদান করছে। আর এখন তার এ অবস্থায় দুশ্চিন্তায় পড়ে গেছে মোস্তাকিম সহ তার পুরো পরিবার। এমতাবস্থায় মোস্তাকিম সরকার ও তার পরিবার সর্বমহলের সহযোগীতা কামনা করছেন।


মোস্তাকিম সরকার জানান, মার্চের ১৮ তারিখে তার মা অসুস্থ হয়ে পড়েন। করোনার এই ভয়ানক পরিস্থিতিতে তার মা কে ডাক্তার দেখানো তখন সম্ভব হয়নি। এপ্রিলের ২৫ তারিখে ওনার শারীরিক অবস্থা বেশ বেগতিক হয়ে পড়লে অনেক ঝামেলার পর রংপুর মেডিকেলে ভর্তি করানো হয়। সেখানকার একজন নিউরোলজিস্ট রোগটি শনাক্ত করেন। এখন পর্যন্ত চিকিৎসা বাবদ ২ লক্ষ টাকার উপরে খরচ হয়েছে।


মোস্তাকিমের সাথে কথা বলে আরো জানা যায়, তার বাবা একজন কৃষক। ফিজিওথেরাপি চলছে তার মায়ের। প্রতিদিন হাসপাতালে ২ হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। এতে তার পরিবার পুরোপুরি অর্থ সংকটে পড়েছে। বিরল এই রোগটির চিকিৎসার জন্য গত তিনমাসে প্রায় ২ লক্ষ টাকা খরচ হয়ে গেছে। আরো অনেকদিন এই চিকিৎসা চালিয়ে যেতে হবে। এই বিশাল অর্থের সংকুলান সম্ভব হচ্ছে না আমার পরিবারের দ্বারা। করোনার জন্য আরো হিমশিম খেতে হচ্ছে আমাদের। পুরো চিকিৎসা ব্যয় কত হতে পারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, চিকিৎসা দীর্ঘমেয়াদি অনেক দিন লাগবে। ডাক্তার বলেছেন, আনুসাঙ্গিক খরচ ৮-৯ লক্ষ টাকার উপরে হবে।


মোস্তাকিম সরকার তার মাকে বাঁচাতে সকলের কাছে অনুরোধ করে বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য মহোদয় ও সমাজের বিত্তশালীদের সাহায্য ছাড়া বাবার চিকিৎসা করানো সম্ভব নয়। এখন আপনাদের সাহায্যই আমার মায়ের চিকিৎসার শেষ ভরসা। আমার মায়ের জীবন বাঁচাতে আমি সর্বমহলের দোয়া ও সহযোগীতা কামনা করছি।


যোগাযোগঃ-
মোস্তাকিম সরকার
১ম বর্ষ (১৫ ব্যাচ)
সংগীত বিভাগ,
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।
বিকাশ-01723221880 (মোস্তাকিম) 
নগদ-01871341218 (মোস্তাকিম)
রকেট-015331014282 
(শৈলী পাল, মোস্তাকিমের বন্ধু)

ঝিকরগাছার এসআই সিরাজুল ইসলাম করোনায় আক্রান্ত, দোয়া চেয়ে বিবৃতি প্রদান

ঝিকরগাছার এসআই সিরাজুল ইসলাম করোনায় আক্রান্ত, দোয়া চেয়ে বিবৃতি প্রদান




স্টাফ রিপোর্টার: যশোর জেলার ঝিকরগাছা থানার মো: এসআই সিরাজুল ইসলাম করোনায় আক্রান্ত হয়ে নিজ বাসায় আইসোলেশনে  আছেন।
জানা যায় গত বৃহস্পতিবার যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রিপোর্টে ঝিকরগাছা থানার সুযোগ্য  এসআই মোঃ সিরাজুল ইসলামের শরীরে করোনা পজেটিভ হলে তিনি তার নিজ বাসায় আইসোলেশনে চলে যান। মুঠোফোনের মাধ্যমে তার সাথে যোগাযোগ করে শরীরের অবস্থা জানতে চাইলে তিনি জানান মোটামুটি সুস্থ আছেন।
তার দ্রুত সুস্থতা কামনা করে দেশবাসীর কাছে দোয়া আছে বিবৃতি প্রদান করেছেন এসআই মোঃ সিরাজুল ইসলামের দায়িত্বপ্রাপ্ত (ইউনিয়ন) ১ নং গঙ্গানন্দপুর  ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমান এমপি প্রতিনিধি মোঃ আমিনুর রহমান, দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজ এর সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ মহসীন আলী (প্রভাষক) প্রমুখ।


সিঙ্গাপুরে সার্কিট ব্রেকার তুলে নেওয়ার দ্বিতীয় ধাপের প্রথম দিন আজ

সিঙ্গাপুরে সার্কিট ব্রেকার তুলে নেওয়ার দ্বিতীয় ধাপের প্রথম দিন আজ





মোঃ নাইম শেখ ,সিঙ্গাপুর প্রতিনিধি:
সিঙ্গাপুরে সার্কিট ব্রেকার তুলে নেওয়ার দ্বিতীয় ধাপের প্রথমদিন আজ।

খাবারের দোকানে লক্ষনীয় ভীড় ছিল না 
যদিও সপ্তাহে প্রথম বাহিরে খাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল,তবুও শুক্রবার (১৯ জুন) সকালে খাবারের টেবিলে কোনও লক্ষনীয় ভিড় ছিল না। উল্লেখ্য, সিঙ্গাপুর সার্কিট ব্রেকার তুলে নেওয়ার দ্বিতীয় ধাপ আজ থেকে শুরু হয়েছে৷ 
বুকিট টিমাহ মার্কেটে এবং কোভান হকার সেন্টারে জনপ্রিয় স্টলের সামনে সারিবদ্ধ লাইন তৈরি হলেও বেশিরভাগ মানুষ খাবার প্যাকেট করে নিচ্ছিলেন৷ 

ছোট ছোট দলে বন্ধুবান্ধব, বেশিরভাগ সিনিয়ররা কোভানে চিট-চ্যাট এবং কফি পানের জন্য জড়ো হয়েছিল৷ তবে তারা নিরাপদ দূরত্বের ব্যবস্থা অব্যাহত রেখেছিল এবং পাঁচ জনের গ্রুপের নিয়ম রক্ষা করে জড়ো হয়েছিল । 
সার্কিট ব্রেকার তুলে নেওয়ার দ্বিতীয় ধাপে , পাঁচ জনের গ্রুপ সামাজিকভাবে দেখা করতে পারবে। এটি এমন কমিউনিটির জন্য প্রযোজ্য যারা বাহিরে খাবার খেতে পছন্দ করেন। এখন বাহিরে খাবার খাওয়া অনুমোদিত।

বুকিত তিমাহ মার্কেটের তার ৫০ বছর বয়স্ক এক মহিলা, যিনি মিস টান হিসাবে নামে পরিচিত। তিনি বলেছিলেন যে তিনি "যথেষ্ট ভয় পেয়েছিলেন" যে জায়গাটি অনেক ভীড় হবে। "আসলে, এটি খারাপ নয় যেহেতু এটি বেশ শান্ত, তাই আমি মনে করি পরিবারের জন্য খাবার বাড়ি কেনার আগে আমার কফি পানের সুযোগ আছে। 

শুক্রবার সকালে অপেক্ষাকৃত মধ্যরাতের পরে সিম্পাং বেদোকের দৃশ্য থেকে বেশ আলাদা ছিল। যেখানে লোকেরা তাদের অনুমতি দেওয়ার সাথে সাথে রাতের খাবারের জন্য জড়ো হয়েছিল।

যদিও বৃষ্টি হচ্ছে, প্রায় ৯০ ভাগ টেবিল গভীর রাতে পুরোপুরি দখল করে ছিল।

খাবারের দোকানের পৃষ্ঠপোষকরা তাদের ডিজিটাল চেক-ইন সিস্টেম সেইফএন্ট্রি মাধ্যমে তাদেরকে প্রবেশ করতে বলেছিলেন এবং কর্মীদের দ্বারা তাদের তাপমাত্রা রেকর্ড করার জন্য বলা হয়েছিল।
ডাইনে-ইনগুলি পুনরায় শুরু করার পাশাপাশি খুচরা আউটলেটগুলিকে নিরাপদ দূরত্বে ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি দ্বিতীয় ধাপে পুনরায় খোলার অনুমতি দেওয়া হয়।

এমআরটি স্টেশন থেকে আয়ন অর্চার্ড এবং উইসমা আত্রিয়ার প্রবেশপথগুলি স্পষ্টভাবে নির্ধারণ করা হয়েছিল যাতে দর্শনার্থীরা মলে প্রবেশ করতে চাইলে তাদের মধ্য দিয়ে বিস্মৃত হন।
এদিকে, Nex শপিং মলের বাইরে কমপক্ষে পাঁচজন নিরাপদ দূরত্বে এম্বাসেডরকে ডিউটি করতে দেখা গেছে । 

এছাড়াও আজ পুনরায় খোলা হ'ল খেলাধুলার সুবিধা যেমন জিম এবং সাঁতারের কমপ্লেক্স, কনডমিনিয়ামগুলি সহ, পাশাপাশি সৈকত এবং খেলার মাঠ।

শুক্রবার (১৯ জুন) সকাল ০৭.৩০ মিনিটে মিঃ লিউ কই খিউন তার ২২ মাসের কন্যা মায়াকে পোটং পাশির একটি খেলার মাঠে নিয়ে গিয়েছিলেন, এমনকি নিজের বাধা টেপটি সরিয়ে নিয়েছিলেন
তাকে আবার খেলার মাঠে খেলতে দেওয়া তার মোটর দক্ষতার বিকাশের জন্য ভাল ছিল, বলেছেন গবেষক।

তিনি আরও যোগ করেছেন, "দুই মাস বন্ধ থাকার পরে আমি খেলার মাঠের তাৎপর্যটি সত্যই উপলব্ধি করতে শিখেছি,"


ঝিনাইদহে ধানের চারা দিতে গিয়ে বজ্রপাতে ১ কৃষকের মৃত্যু!

ঝিনাইদহে ধানের চারা দিতে গিয়ে  বজ্রপাতে ১ কৃষকের মৃত্যু!





খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 



ঝিনাইদহের  মধুহাটি ইউনিয়নের জিয়ালা গ্রামে বজ্রপাতে লিটন (৫০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে জিয়ালার মাঠে ধানের চারা ফেলতে যায় কৃষক লিটন মিয়া  বজ্রপাতে ঘটনা স্থলে নিহত হয়। তিনি সদর উপজেলার মধুহাটি ইউনিয়নের জিয়ালা গ্রামের ইসলাম মিয়ার ছেলে। লিটন মিয়ার অকাল মৃত্যুতে তার পরিবার ও এলাকায়  শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ঝিনাইদহে শিশুর ইজ্জতের মূল্য ১৭৫০০ টাকা?

ঝিনাইদহে শিশুর ইজ্জতের মূল্য ১৭৫০০ টাকা?



 

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 



ঝিনাইদহ মহেশপুর উপজেলার নাটিমা ইউনিয়নের জাগুসা গ্রামের ১০ বছরের শিশুর ইজ্জতের মূল্য নির্ধারন করা হয়েছে ১৭৫০০ টাকা। গতকাল রাত্রে জাগুসার বিতর্কিত সাবেক ইউপি সদস্য  ডাঃ তবিবুর রহমানের নেতৃত্বে গ্রাম্য শালিশের মাধ্যমে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে ট্রাক ড্রাইভার সোহরাবকে এ জরিমানা করা হয়। ধর্ষকের বিচার গ্রাম্য শালিসে করা আদৌও কি ঠিক? প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে এলাকাবাসী।

কাগমারি মোসাপ কাক্কার মৃত্যুতে সাবেক চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান এর শোক প্রকাশ

কাগমারি মোসাপ কাক্কার মৃত্যুতে সাবেক চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান এর শোক প্রকাশ




নিউজ ডেস্ক: যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার কাগমারি গ্রামের মোসাপ কাক্কা স্ট্রোক জনিত কারণে ইন্তেকাল করেছেন ( ইন্নালিল্লাহি ------রাজিউন) । জানা যায় ১৮  জুন দিবাগত রাত আনুমানিক ১২:১০ মিনিটে স্ট্রোক করে নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন ১ নং গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের কাগমারী গ্রামের মৃত শাহাবুদ্দিনের ছেলে মোসাপ (০)। মরহুমের মৃত্যুতে তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করে তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা সহ শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমান এমপি প্রতিনিধি মোঃ আমিনুর রহমান,দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজ এর সম্পাদক ও প্রকাশকঃ মোঃ মহসীন আলী (প্রভাষক) প্রমুখ।


নওগাঁয় ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া

নওগাঁয় ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া


 


মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

আজ শুক্রবার সকাল ৯ টায় ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের উদ্যোগে 
নওগাঁ জেলা ও সদর উপজেলা মডেল রিসার্চ সেন্টারে মরহুম মাননীয় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ এর রুহের মাগফেরাত কামনা করে কোরআন শরিফ খতম ও দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়৷ 

উক্ত কোরআন শরিফ খতম দোয়ার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নওগাঁ জেলা কার্যলয় এর উপ পরিচালক আলহাজ মোঃ গোলাম মোস্তফা, 

 আরো উপস্থিত ছিলেন নওগাঁ উপজেলার ফিল্ড সুপারভাইজার মোঃ আকবর হোসেন, এবং মডেল কেয়ার টেকার মোঃ গোলাম রাব্বানী, আল-আমীন ৷

ঝিনাইদহ মহেশপুরে করোনায় আক্রান্ত ২ ব্যাক্তি'র সহ সংস্পর্শে আসা বাড়িগুলা লকডাউন

ঝিনাইদহ মহেশপুরে করোনায় আক্রান্ত ২ ব্যাক্তি'র সহ সংস্পর্শে আসা বাড়িগুলা লকডাউন




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 



ঝিনাইদহের মহেশপুরে ১৯-৬-২০২০ইং তারিখ ১২টি রিপোর্ট এসে পৌঁছেছে,তার মধ্যে ১০জনের নেগেটিভ,  ২জনের পজিটিভ।উক্ত ব্যক্তির বাড়ি  ভৈরবা  ও খালিশপুর  গ্রামে।আর উনাদের একজন কুষ্টিয়া থেকে আগত ওপর জন স্বাস্থকর্মী।আজ দুপুরে পর্যায়ক্রমে ২ব্যাক্তির বাড়ি সহ তাদের সংস্পর্শে আসা বাড়ি  গুলো লকডাউন করা হয়েছে।এ সময় উপস্থিত ছিলেন  এসিল্যান্ড সুজন সরকার,উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা:আঞ্জুমান আরা, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা:আকবর নিয়াজ মাহবুদ,সংশ্লিষ্ট  ইউনিয়ন চেয়ারম্যান,পুলিশের প্রতিনিধিগণ।এ পর্যন্ত আক্রান্ত ৮জন।সুস্থ হয়েছেন ২জন।

জবিকে নিয়ে জবি শিক্ষার্থীর কবিতা, সেপ্টেম্বর অন জবি'

জবিকে নিয়ে জবি শিক্ষার্থীর কবিতা, সেপ্টেম্বর অন জবি'





শত শত জবিয়ান অবকাশ দেখে
শান্তচত্ত্বরের চারিধারে বসত বেঁকে,
শত শত প্রেমিক প্রেমিকার দল
ছাউনিবিহীন ড্রেনে পচা জল।
মাস্ক মুখে সকল ছাত্রছাত্রী
হতে চায় সবাই কনসার্টের যাত্রী,
টিএসসি বসত ফুসকা চা -ওয়ালা
নালিশ জানাবে কাকে ভাংলে পিয়ালা।
হলহীন মোরা ঘুম নেই কারো চোখে
করোনায় ছিন্নভিন্ন ঘরবাড়ি দেখে,
মাথার ভিতরে বিসিএস ঘুরে
কালরাত শেষ হবার কথা মনে করে।
শত শত প্রেমিকা হায় সেপ্টেম্বরে
ভিক্টোরিয়া পার্ক কল্পনায় ঘুরে,
স্বপ্নসন্ধ্যাণী মুখগুলো আধমরা বলে
কাঁঠালতলায় উদ্দেশ্যহীন ছুটে চলে।
ভবনগুলো চলেছে রাজপথ ধরে
ক্যান্টিনের ভিড়ের কথা মনে করে,
হাকিমে শহীদমিনার ছাত্রদের মিছিল
লালবাসের কাদামাখা রাস্তা পিছিল।
সেপ্টেম্বর হায় দুই হাজার বিশ
আবারও ক্যাম্পাসে ফিরিয়ে দিস।



মোঃ আল-আমিন
১ম বর্ষ (১৫ তম ব্যাচ)
আইন বিভাগ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

দৌলতপুরের মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে ফেক ফেইসবুক এ্যাকাউন্ট নিয়ে

দৌলতপুরের মানুষের মাঝে  আতঙ্ক বিরাজ করছে ফেক ফেইসবুক  এ্যাকাউন্ট নিয়ে




কুষ্টিয়া প্রতিনিধি,এম,ডি, আল আসিবুজ্জামান চঞ্চল। 


কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের মানুষ আতঙ্কে আছে ফেক ফেইসবুক এ্যাকাউন্ট নিয়ে। সাধারন সম্মানীয় মানুষদের ছবি দিয়ে খুলছে ফেইক আইডি, আতঙ্কে আছে শিক্ষক, ব্যাবসায়ী সহ অনেকে।

গত ২ দিন ধরে কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের মথুরাপুর সহ আশেপাশের এলাকার সমাজের সম্মানিত ব্যক্তিদের ছবি দিয়ে এবং তার নাম দিয়ে কে বা কাহারা খুলছে ফেক ফেইসবুক এ্যাকাউন্ট। 
এবং সেই ফেক ফেইসবুক  এ্যাকাউন্ট দিয়ে সমাজের সম্মানিয় ব্যাক্তিদের পরিচিত জনদের কাছে থেকে টাকা ধার চাচ্ছে কুচক্রী ব্যাক্তি বা মহল। 
এনিয়ে সমাজের সম্মানিত  ভুক্তভোগীরা  আছে আতঙ্কে। 
এ থেকে রেহায় পাচ্ছে না শিক্ষক, ব্যাবসায়ী সহ সাংবাদিক ও। 
দৌলতপুরের মথুরাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের  প্রধান শিক্ষক আব্দুর রশিদ ও ভুগছেন একই সমস্যায়, তার ছবি ও নাম দিয়ে খোলা হয়েছে হুবুহু একটি ফেইসবুক এ্যাকাউন্ট এবং তা দিয়ে তার পরিচিত ব্যাক্তিদের থেকে ধার চাওয়া হচ্ছে টাকা। এ নিয়ে তিনি দিশেহারা হলে এক পর্যায়ে দৌলতপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন তিনি, যার  জিডি নং ৯৬১ দৌলতপুর থানা,কুষ্টিয়া। তাং ১৮,৬,২০২০ খ্রিঃ।

এছাড়াও স্বজন  নামে এক ব্যাবসায়ী তাকেও পোহাতে হচ্ছে এই একই ঝামেলা। 

কুচক্রী ব্যাক্তি বা মহল ০১৪০৮০৮৮৬৩৮ নাম্বার দিচ্ছে বিকাশে টাকা ধার নেওয়ার জন্য, এই অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। 
ভুক্তভোগীদের দাবি দ্রুত এই কুচক্রী মহলকে আইনের  আওতাই আনা হোক।

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিদুৎপৃষ্টে হয়ে নিহত-১

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিদুৎপৃষ্টে হয়ে নিহত-১





মোঃ ফিরোজ হোসাইন   
রাজশাহী ব্যুরো

 নওগাঁর আত্রাইয়ে বিদুৎপৃষ্টে শাহিন খন্দকার (৪২) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। নিহত শাহিন খন্দকার উপজেলার শাহাগোলা ইউনিয়নের ফুলবাড়ি গ্রামের মৃত মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শাহিন খন্দকার শুক্রবার সকালে তার বাড়ির পাশে খড়ের (পোয়ালের) পালার কাজ করছিলো। কাজের এক পর্যায়ে ৩৩ হাজার ভোল্টের আত্রাই-নওগাঁ মেইন লাইনের তারের সংস্পর্শে বিদুৎপৃষ্ট হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পরে। সাথে সাথে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত শাহিন খন্দকার তার নিজ বাড়িতে খর  (পোয়ালের) কাজ করার সময় বিদুৎপৃষ্টে মৃত্যু বরণ করেন এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

পাটকেলঘাটার মানিকহার গ্রামের ইকবাল হোসেন এর বাড়ি লকডাউন

পাটকেলঘাটার মানিকহার গ্রামের ইকবাল হোসেন এর বাড়ি লকডাউন





আজহারুল ইসলাম সাদী, জেলা প্রতিনিধিঃ
সাতক্ষীরা জেলার পাটকেলঘাটা থানার মানিকহার গ্রামের আব্দুল মজিদ এর ছেলে ইকবাল হোসেন (৩২) করোনা ভাইরাস এ আক্রান্ত হওয়ায় তার বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।
সে রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র (পাওয়ারপ্লান্ট) এ ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে চাকুরী কারাকালীন ২জুন-২০২০ শারীরিক ভাবে অসুস্থ হইলে নমুনা পরিক্ষা করান। ৫ জুন রিপোর্ট পজিটিভ হওয়ায় পাওয়ার প্লান্টের কর্তৃপক্ষ উক্ত ইকবাল হোসেনকে তাহাদের নিয়ন্ত্রনে ১৭ দিন আইসোলেশনে রাখেন। ১৮জুন তিনি নিজ বাড়িতে আসার পথে খুলনা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট মেডিকেল হাসপাতালে নিজ উদ্যোগে পুনরায় কোভিড-১৯ এর নমুনা প্রদান করেন তিনি।
১৮জুন বিকালে নিজ বাড়ি মানিকহার গ্রামে আসেন।
এরপর করোনা ভাইরাস প্রতিরোধকল্পে এবং এলাকাবাসীর সর্বোত্তম স্বার্থে পাটকেলঘাটা থানার কুইক রেসপন্স টিম দ্বারা রাতেই তাহার বাড়িসহ আশপাশের ১০টি বাড়ি লকডাউন করা হয় । এ সময় এলাকাবাসী কে আতঙ্কিত না হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং সাতক্ষীরা জেলা পুলিশকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানানো হয়।

৫.৭ কি:মি রাস্তা পাকাকরনে বদলে গেলো লক্ষাধিক মানুষের জীবনমান

৫.৭  কি:মি রাস্তা পাকাকরনে বদলে গেলো   লক্ষাধিক মানুষের জীবনমান




রাজু আহমেদ, নাটোর: 
তাজপুর ও শেরকোল  ইউনিয়নবাসির দীর্ঘদিনের অবহেলিত জনপথ পাকাকরণের মাধ্যমে পুরণ হলো মানুষের প্রানের দাবি। বদলে গেলো এলাকার লক্ষাধিক  মানুষের জীবনমান। 

 জানা গেছে, এলজিইডির ববাস্তবায়নে তাজপুর থেকে নওগাঁ বাজার ভায়া শাহাবাজপুর পর্যন্ত ৫.৭  কি.মি. এই রাস্তাটি নির্মানে  ব্যয় হয়েছে প্রায় ৪ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা। অতীতে  এটি ছিল অবহেলিত ও চলাচলের অনুপযোগী একটি রাস্তা।  রাস্তাটির নির্মান কাজ সমাপ্ত হওয়ায় বর্তমানে এটি প্রায় ১২ টি গ্রাম ও আত্রাই উপজেলার সাথে সিংড়া উপজেলায় যোগাযোগের অন্যতম রাস্তা হিসাবে  ব্যবহৃত হচ্ছে। এই রাস্তাটি পাকা হওয়ার  ফলে ইতিমধ্যে সুফল পেতে শুরু করছে এলাকাবাসী। এতে প্রায় লক্ষাধিক লোকের জীবনমান পরিবর্তন ঘটবে। 

এলাকাবাসীর  জানায়, বর্তমানে সিংড়ার সাথে তাদের যোগাযোগ সহজ হয়েছে এবং এই রাস্তার ফলে কৃষকরা ধানসহ অন্যন্যে কৃষি পণ্যের ন্যায্য দাম পাবে। সহজে  যাতায়াত করতে পারবে। এলাকার ছেলে মেয়েদের উচ্চ শিক্ষায় উৎসাহ বাড়বে। 

স্থানীয় কয়েকজন জানান, অত্র এলাকা ছিলো খুবই অবহেলিত, দুর্গম। এক হাঁটু কাঁদা মাটি পেরিয়ে সিংড়া পৌর এলাকা  কিংবা তাজপুর বাজার যেতে হয়েছে। একটু বৃষ্টি হলে  কোনো রকম যানবাহন চলতো না। কৃষকদের নিদারুন কষ্ট করতে হয়েছে। বাজার থেকে পণ্য সরবরাহ ও ক্রয় করে বাড়ি আসতে মাথার ঘাম পায়ে পড়েছে। বর্তমানে খুব সহজে পণ্য সরবরাহ ও বাজারে যেতে পারছে তারা।  স্কুলে ছাত্রছাত্রীদের মাইলের পর মাইল পায়ে হেঁটে যেতে হবে না। অসুস্থ রোগীকে সহজে উন্নত সেবার জন্য নিয়ে যেতে পারবে। 

তাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান মিনহাজ উদ্দিন  বলেন, এটি ছিল নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি।  এ অঞ্চলের জনগনের প্রানের দাবি যেটি পুরণ হওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলককে ধন্যবাদ জানান এবং বলেন
এই রাস্তার ফলে জনগণের সিংড়ার সাথে যোগাযোগ বেড়েছে এবং জনগণ প্রতিনিয়ত তার সুফল ভোগ করছে। রাস্তাটি হওয়ার ফলে জনগণের দীর্ঘদিনের দুর্ভোগের অবসান হলো। 

শেরকোল ইউপি চেয়ারম্যান  অধ্যক্ষ লুৎফুল হাবিব রুবেল জানান, অবহেলিত এ জনপদের মানুষ কখনো কল্পনা করতে পারেনি।  কিন্তু মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি মহোদয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় তা বাস্তবতায়।  এ রাস্তার ফলে এলাকার মানুষের আর্থ, সামাজিক, অর্থনৈতিক এবং ব্যবসার উন্নয়ন ঘটবে। মানুষের দীর্ঘদিনের দুর্ভোগের অবসান ঘটলো।  এজন্য তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। 

উপজেলা প্রকৌশলী হাসান আলী জানান, 
গ্রেটার রাজশাহী ডিভিশন উন্নয়ন প্রকল্প 
এর আওতায় ৪ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে বৃহত্তর এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে।  
রাস্তাটি টেকসই করার জন্য মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয় জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি কিছু নির্দেশনা দিয়েছেন, আমরা তা বাস্তবায়ন করবো।
 তিনি আরো বলেন, রাস্তাটি বাস্তবায়নে আমরা চেষ্টা করেছি।সিসি ব্লক এবং প্রটেকশন ওয়াল নির্মান করা হয়েছে।  রাস্তার দু ধারে বৃক্ষ রোপনের পরিকল্পনা রয়েছে।


করোনার সর্বশেষ তথ্য

করোনার সর্বশেষ তথ্য



নিউজ  ডেস্কঃ গত (১৯ জুন) ২৪ ঘন্টায় নমুনা পরীক্ষাঃ-১৫,০৪৫জন
নতুন আক্রান্তঃ-৩,২৪৩জন     
মোট আক্রান্তঃ-১,০৫,৫৩৫জন
 মৃত্যুঃ-৪৫জন
 মোট  মৃত্যুঃ-১,৩৮৮জন
 সুস্থঃ-২,৭৮১জন
 মোট সুস্থঃ-৪২,৯৪৫জন 

সুত্রঃ- আইইডিসিআর ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তর 

সরোজগন্জ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন উদ্বোধন

সরোজগন্জ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন উদ্বোধন



কাউসার আলী চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

আজ শুক্রবার(১৯ জুন) সকাল ১১ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার সরোজগন্জ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৪ তলা ভিত বিশিষ্ট ১ তলা একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি,বীর মুক্তিযোদ্ধা,জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ এবং পর পর দুইবার নির্বাচিত চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার সেলুন।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং সাবেক পৌরমেয়র জনাব রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন,স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, বিদ্যালয়ের সভাপতি,প্রধান শিক্ষকসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।
এসময় তারা মাধ্যমিক শিক্ষার ব্যাপক উন্নয়নের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানাই।

কোটচাঁদপুরে ভেঙে পড়া ব্রিজের ওপর সাঁকো নির্মাণ করে দিলেন, আওয়ামীলীগ নেতা

কোটচাঁদপুরে ভেঙে পড়া ব্রিজের ওপর সাঁকো নির্মাণ করে দিলেন, আওয়ামীলীগ নেতা





খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 


ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের আঘাতে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর পৌরসভার সলেমানপুর দাস পাড়ার চলাচলের একমাত্র অবলম্বন একটি কালভাট ব্রিজটি ভেঙে পড়ে,  এতে ওই এলাকাবাসীর জীবনযাত্রার গতিপথে বিঘ্নিত হয়, ওপার থেকে এপার আসতে পোহাতে হয় চরম দূর্ভোগ। ঠিকমত বের হতে না পারায় জীবিকা নির্বাহের জন্য আসাযাওয়া করতে বাধা সৃষ্টি হয়, এতে করে তাদের জীবনে সৃষ্টি হয় নতুন এক অশান্তি। 
ঠিক এই সময়ে মানবতার দূত হিসেবে ছুটে আসে কোটচাঁদপুর পৌর-আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ সহিদুজ্জামান সেলিম। তার নিজ অর্থায়নে ওই এলাকাবাসীর চলাচলের জন্য করে দেন একটি বাঁশের সাঁকো ব্রিজ। 
 উক্ত এলাকাবাসীর কয়েকজনের সাথে কথা বললে তারা আবেগআপ্লুত হয়ে দুহাত তুলে আল্লাহর কাছে দোয়া করেন সহিদুজ্জামান সেলিমের জন্য, তারা বলেন এ পর্যন্ত  কোন বিত্তশালী ও জনপ্রতিনিধিরা খোঁজ নেননি, আর সেই মূহুর্তে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ান আমাদের নেতা জনাব সহিদুজ্জামান সেলিম,  
তারা আরো ও বলেন সামনে কোটচাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের পক্ষে নৌকা প্রতিক নিয়ে অংশগ্রহণ করেন,  এতে করে এলাকাবাসী তার সাথে সবসময় পাশে থাকবে।
এবিষয়ে  জনাব সহিদুজ্জামান সেলিমের সাথে কথা বললে তিনি জানান 
শুধু নির্বাচন কেন্দ্রীক না, 
মানুষের বিপদে আপদে সবসময় পাশে থাকায় তার ধর্ম,  তিনি যতদিন বাঁচবেন ততদিনই মানুষের  কল্যানে এগিয়ে যাবেন। তিনি আরও জানান 
মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবে কোটচাঁদপুর পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের প্রায় দুই থেকে তিন হাজার অসহায় দুস্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী  বিতরন করেন। 
এবং সবসময় অসহায় মানুষের পাশে থাকার আশ্বাস দেন এবং সমাজের সকল বিত্তবান মানুষদের কে অসহায় দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ করেন।

নীলফামারীতে নতুন করে আর ৯ জনসহ মোট করোনায় আক্রান্ত ২৭৮ জন

নীলফামারীতে নতুন করে আর ৯ জনসহ মোট করোনায় আক্রান্ত ২৭৮ জন





মোঃ হাবিবুর রহমান শাকিল ডিমলা নীলফামারী প্রতিনিধি:



করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের সংখ্যায় নীলফামারী জেলায় নতুন করে আরও ৯ জন যুক্ত হয়েছেন।এ নিয়ে পুরো জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো মোট ২৭৮ জন।বৃহস্পতিবার(১৮ জুন) রাতে সিভিল সার্জন ডাঃ রনজিৎ কুমার বর্মন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাব হতে ১১,১২,১৫ ও ১৮ জুনের প্রেরিত ২৮টি নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ৯ জন আক্রান্তের এ তথ্য পাওয়া গেছে।

নতুন করে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিরা হলেন, নীলফামারী পৌরসভার কলেজপাড়ায় একই পরিবারের মা-ছেলে সহ দুইজন, পঞ্চপুকুর ইউনিয়নের চেংমারীর এক যুবক, জলঢাকা পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বগুলাগাড়ী এলাকায় দুইজন, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ডাঙ্গাপাড়ায় একজন যুবক, ডোমার উপজেলার ছোটরাউতা কাজিপাড়ার একই পরিবারের বাবা-ছেলে সহ দুইজন ও ডিমলা উপজেলার খগাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের বন্দরখড়িবাড়ি এলাকার এক যুবক।

উল্লেখ্য:-নীলফামারী জেলার ২৭৮ জনের মধ্যে নীলফামারী সদরে ৮৮, জলঢাকা উপজেলায় ৫২, ডিমলা উপজেলায় ৪৫, সৈয়দপুর উপজেলায় ৩৬, ডোমার উপজেলায় ৩৩ ও কিশোরগঞ্জ উপজেলায় ২৫ জন।মৃত্যু বরন করেছেন ৬ জন। সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১২৯ জন।

রহনপুর বিজিবি ব্যাটেলিয়ন সিপাহীর আত্মহত্যা!

রহনপুর বিজিবি ব্যাটেলিয়ন সিপাহীর আত্মহত্যা!




শামিম উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুরের রহনপুর ৫৯-বিজিবি ব্যাটেলিয়ন সিপাহী ফরহাদ হোসেন গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।
বিশ্বস্ত সুত্রে জানা যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৯ বিজিবি ব্যাটেলিয়নের সিপাহী ফরহাদ হোসেন দুই সপ্তাহের জন্য বিজিবি সেক্টর হেড-কোয়াটার রাজশাহীতে এপিসি ক্যাডার করার জন্য আসে।গতকাল বৃহঃপ্রতিবার (১৮ জুন) দিন গত রাতে তাহার এম টি গ্যারেজে নাইট ডিউটি ছিল,আনুমানিক রাত সাড়ে ৮টায় ঘটিকায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

রাজশাহীর চন্দ্রিমা থানার এস আই মাসুদ জানায়,এ ঘটনাটি প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক জের ধরে আত্মহত্যা বলে মনে হয়,তিনি আরোও বলেন মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য নেওয়া হয়েছে,ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে সব কিছু।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় করোনায় মৃত্যু ব্যাক্তির দাফন সম্পন্ন

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় করোনায় মৃত্যু ব্যাক্তির দাফন  সম্পন্ন




সম্রাট হোসেন  শৈলকুপা উপজেলা প্রতিনিধি 

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঝরে গেলো আরেকটি প্রাণ।মৃত ব্যক্তির নাম আব্দুস শুকুর। উলুবাড়িয়া, লাঙ্গলবাধ, শৈলকুপা,  ঝিনাইদহ।  সোনালী ব্যাংক,আগারগাঁও শাখার এ জি এম। ১৮/০৬/২০২০ তারিখ বেলা ১১.৩০ মিনিটে করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকাতে মারা যান। ঢাকা থেকে লাশ গ্রামের বাড়িতে পৌঁছাতে রাত  প্রায় ১০ টা বেজে যায়।রাত ১১.০০ টার সময় উপজেলা প্রশাসন,শৈলকুপার উদ্যোগে,ইসলামিক ফাউন্ডেশন শৈলকুপার লাশ দাফন কমিটির সম্মানিত সদস্যগণের সহযোগিতায় দাফন কার্য সম্পন্ন করা হয়।

মাধবপুরে বালু উত্তোলন করায় ৩ জনকে কারাদন্ড, ৯টি ব্যবসা প্রতিষ্টানকে জরিমানা

মাধবপুরে বালু উত্তোলন করায় ৩ জনকে কারাদন্ড, ৯টি ব্যবসা প্রতিষ্টানকে  জরিমানা





লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি 

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় শাহজানপুর ইউনিয়নের সিমনাছড়ার এলাকা থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তলন করায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৩ জনকে ২ মাসের বিনাসশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয় বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) রাতে মাধবপুর উপজেলার, শাহজানপুর ইউনিয়নের সিমনাছড়ার এলাকায় অভিযান চালিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার( ভূমি) আয়েশা আক্তার নদীতে অবৈধভাবে,

নৌকা দিয়ে বালু উত্তলনের দায়ে ৩ জন কে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে, 
পরিচালনা করে ২ মাসের কারাদন্ড, প্রদান করেন। আটককৃত ব্যক্তিরা হল মাধবপুরে আন্দিউড়া ইউনিয়নের মিরনগর গ্রামের (১) কামাল হোসেন (২৬) পিতা আহমেদ খালেদ (২) 

ছোট মিয়া (২০) পিতা রেনু মিয়া, (৩) মহিবুর রহমান, (৩৫) পিতা মৃত হাবিবুর রহমান। মাধবপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আয়েশা আক্তার জানান, এধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে। অবৈধভাবে বালু বা মাটি উত্তোলন করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না-এর 

পরে আরও ৯টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে, জরিমানা করা হয়, নির্দিষ্ট সময়ের পরও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার অপরাধে, ৯টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক কে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা রাতে মাধবপুর 

উপজেলার নোয়াপাড়া ও বাঘাসুরা, বাজারে অভিযান চালায়, বিকাল ৪টার পর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার অপরাধে ৯টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান কে ৪হাজার ৫০০টাকা জরিমানা আদায় করেন মাধবপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি) আয়েশা আক্তার, সত্যতা নিশ্চিত করেন।

হবিগঞ্জ জেলার রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত হলো যেসব এলাকা,

হবিগঞ্জ জেলার রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত হলো যেসব এলাকা,




লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

হবিগঞ্জ জেলার ৯ টি এলাকাকে রেড, জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৮-জুন) হবিগঞ্জ জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির এক সভায় এসব এলাকাকে রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করেছে। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, আজমিরীগঞ্জ সদর, বাহুবল সদর, চুনারুঘাটের ৩ নং দেওরগাছ ইউনিয়ন, ৭ নং উবাহাটা, ৯ নং রানীগাও,

এবং চুনারুঘাট পৌরসভা মাধবপুর, পৌরসভা, হবিগঞ্জ পৌরসভার ৬ ও ৯ নং ওয়ার্ডকে রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এছাড়াও হবিগঞ্জ জেলার ৭ টি এলাকাকে হলুদ জোনের আওতায় আনা হয়েছে। এলাকা গুলো হল-মাধবপুরের ১১ নং বাঘাসুরা ইউনিয়ন, লাখাইয়ের ৪ নং বামৈ ইউনিয়ন, চুনারুঘাটের, 

২ নং আহমদাবাদ, ৬ নং চুনারুঘাট, ৮ নং সাটিয়াজুড়ী এবং ১০ নং মিরাশী ইউনিয়ন এবং নবীগঞ্জ উপজেলার ৮ নং নবীগঞ্জ ইউনিয়নকে হলুদ জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। উল্লেখ্য, সবশেষ সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী ১৫ দিন শুধুমাত্র রেড জোনের আওতায়, 

থাকা সব ধরণের অফিস এবং ওইসব, অঞ্চলে বসবাসরত কর্মকর্তারা সাধারণ ছুটির আওতায় থাকবেন। হলুদ ও গ্রিন জোনের অফিসগুলো নিজ ব্যবস্থাপনায় সীমিত পরিসরে খোলা থাকলেও সেসব অফিসে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে,

চলার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে এই, নিষেধাজ্ঞা চলাকালে কেউ তার নিজস্ব কর্মস্থল ছেড়ে অন্য কোথাও যেতে পারবেন না। এছাড়া ঝুঁকিপূর্ণ, অসুস্থ কর্মচারী এবং সন্তান সম্ভবা নারীদের,

কর্মস্থলে আসতে নিষেধ করা হয়েছে।
এছাড়াও হবিগঞ্জ জেলার সকল দোকানপাট বিকাল ৪ টার পর বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে প্রতারণা, করে হাতিয়ে নিয়েছে ২০ হাজার টাকা

ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে প্রতারণা, করে হাতিয়ে নিয়েছে ২০ হাজার টাকা







খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি 



ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা বাজারের আল্লাহর দান হোটেল মালিকের কাছ থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ভয় দেখিয়ে ইউএনওর নামে ২০ হাজার টাকা নিয়েছে প্রতারক চক্র। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় স্থানীয় সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারের কাছে মৌখিক অভিযোগ করেন হোটেল মালিক সাইফুল ইসলাম।

হোটেল মালিক সাইফুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে এক নারী ফোন করে নিজেকে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিচয় দেন।

লকডাউনের নিয়ম ভঙ্গ করে হোটেল খোলা রাখার অপরাধে আপনার প্রতিষ্ঠানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে। এরপর তিনি বলেন, ২০ হাজার টাকা এই নাম্বারে বিকাশ করলে আর কোনো অসুবিধা হবে না।

সাইফুল জানান, টাকা বিকাশ করার পর স্থানীয়দের বিষয়টি জানালে তারা আমার ভুল ধরিয়ে দেয়। আমি এর যথাযথ প্রতিকার পেতে স্থানীয় সংসদ সদস্যের কাছে বিষয়টি জানিয়েছি।

বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য শুনে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন। এ সময় ৬নং ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সানা উপস্থিত ছিলেন।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুবর্ণা রানী সাহা জানান, বৃহস্পতিবার আমি বালিয়াডাঙ্গা বাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করিনি। এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা চেয়ারম্যান মন্জুর আলম খানসহ দৌলতখানে আরো ১০ জন করোনা শনাক্ত

উপজেলা চেয়ারম্যান  মন্জুর আলম খানসহ দৌলতখানে আরো ১০ জন করোনা শনাক্ত





জেলা প্রতিনিধি ভোলা, দৌলতখানঃ


কোন ক্রমেই কমছে করোনা ভাইরাসের শক্তি।প্রতি দিন বাড়ছে এর আক্রান্তের সংখ্যা।পিছিয়ে নেই দৌলতখান উপজেলাও।
দৌলতখান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মনজুর আলম খান সহ নতুন করে আরো ১০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) শনাক্ত হয়েছে। আজ (১৮ই জুন) বৃহস্পতিবার বিকালে সিভিল সার্জন রতন কুমার ঢালী এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান নতুন আক্রান্ত ১০ জনের মধ্যে চারজনই দৌলতখান উপজেলা চেয়ারম্যানের পরিবারের সদস্য।অন্য আক্রান্তরা হলেন বাংলাবাজার পুলিশ ফাঁড়ির সদস্য ২ জন, উত্তর জয়নগর ইউনিয়নের চালতাতলী এলাকার ১ জন, ব্যাংক কর্মকর্তা ১ জন, পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের মাহাবুব আলম ও দৌলতখান হাসপাতালে কর্মরতের পরিবারের ১ জন। দৌলতখানে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ জন। এদের মধ্যে চারজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। আক্রান্তদের সবাইকে হোম আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে।

বিভাগীয় শিক্ষার্থীদের মালামাল রাখতে জবির আইএইচসি বিভাগের শিক্ষকের মানবিক উদ্যোগ

বিভাগীয় শিক্ষার্থীদের মালামাল রাখতে জবির আইএইচসি বিভাগের শিক্ষকের মানবিক উদ্যোগ




জবি প্রতিনিধিঃ
বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) এর ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের যেসব শিক্ষার্থী মেস/বাসা ভাড়ার সমস্যায় জর্জরিত হয়ে বাসা/মেস ছেড়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে তাদের মালামাল/জিনিসপত্র নিজ বিভাগে রাখার ব্যবস্থা এবং যেকোনো সমস্যায় তাদের পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন অত্র বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও ছাত্র উপদেষ্টা ড. শামছুল কবির।


বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) প্রতিবেদকের সাথে ফোনআলাপে এসব তথ্য জানিয়েছেন ড. শামছুল কবির। এছাড়াও নিজ ফেইসবুক ওয়ালে এ বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি আকারে একটি পোস্ট করেন তিনি।


জরুরী বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সকল ছাত্র-ছাত্রীদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, করোনা ভাইরাস ও বৈশ্বিক মহামারির কারণে বাংলাদেশ সরকারের প্রজ্ঞাপন মোতাবেক দীর্ঘদিন বিশ্ববিদ্যালয় ব্ন্ধ ছিল এবং আরো দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকবে। ইতিমধ্যে অত্র বিভাগের অনেক ছাত্র-ছাত্রী বাসা/মেস ভাড়ার সমস্যায় জর্জরিত। এমনকি উপায় না দেখে বাধ্য হয়ে অনেকে বাসা/মেস ছেড়ে দিতে হচ্ছে। কিন্তু তাদের মালামাল/ জিনিসপত্র রাখার কোন জায়গা পাচ্ছে না যা আমার দৃষ্টিতে আসে। ফলে এসব ছাত্র-ছাত্রীরা যেন ক্ষতিগ্রস্ত/ বিপদ পড়তে না হয় সেইদিক বিবেচনা করে তাদেরকে সহযোগিতা করার জন্য বিভাগীয় ছাত্র-ছাত্রীদেরকে অনুরোধ ও নির্দেশ প্রদান করা হলো।


বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয় যে, কোন উপায় পাওয়া না গেলে সেক্ষেত্রে তোমরা স্ব স্ব শ্রেণি প্রতিনিধির সাথে যোগাযোগ করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো। যদি প্রয়োজন হয় অবশ্যই আমি তোমাদের জিনিসপত্র / মালামাল আমাদের বিভাগে রাখার ব্যবস্থা করব; ইনশাআল্লাহ। আমার প্রিয় ছাত্র- ছাত্রীবৃন্দ, তোমরা নিরাপদে থাকো, সুস্থ থাকো এই কামনা করি।


এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ড. শামছুল কবির বলেন, ছাত্র উপদেষ্টা হিসেবে নিজ বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য সম্পূর্ণ ব্যক্তিগতভাবে উদ্যোগটি নিয়েছি। আমি ৩-৪ টা পরিকল্পনা করেছি। প্রথমত, বিভাগের শিক্ষার্থীরা নিজেদের মধ্যে কথা বলে যেসব মেস খালি আছে সেখানে যাদের সমস্যা তাদের মালপত্র রাখতে পারে। দ্বিতীয়ত, যাদের মেসে সম্পূর্ণ রুম খালি আছে, সেখানে তারা ভাড়া হিসেবে তাদের জিনিসপত্র রাখতে পারে। তৃতীয়ত, একান্তই সমস্যা হলে শিক্ষার্থীদের মালপত্র আমার বাসায় ও রাখতে পারবে। দরকার পড়লে আমি নিজে একটি স্টোর রুম ভাড়া করবো। যাতায়াতে সমস্যা হলে প্রয়োজনে আমার অফিস রুমেও মালামাল রাখার ব্যবস্থা করে দিবো। এসব ব্যাপারে শ্রেণী প্রতিনিধিদের প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেয়া আছে। করোনা পরিস্থিতি বিশ্ববিদ্যালয় খোলার কথা মাথায় রেখে কিছু জিনিসপত্র যেমন খাট, চেয়ার, টেবিল বিক্রির ও পরামর্শ দেন তিনি।

কুয়েতে করোনা ভাইরাসে নতুন আক্রান্ত ৫৪১ জন মৃত্যু ২ জন আজ সুস্থতা লাভ করছেন ৬১৬ জন

কুয়েতে করোনা ভাইরাসে নতুন আক্রান্ত ৫৪১ জন মৃত্যু ২ জন আজ সুস্থতা লাভ করছেন ৬১৬ জন





দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুরঃ
কুয়েতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য মতে, আজ ১৮ জুন করোনা ভাইরাসে আরো ৫৪১ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন বলে শনাক্ত করা হয়েছে।
এ পর্যন্ত কুয়েতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৮০৭৪ জনে, চিকিৎসাধীন  ৮২৫৪ জন, গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থতা লাভ করেছেন ৬১৬, মোট সুস্থতা লাভ করেছেন ২৯৫১২ জন ও বর্তমানে সংকটপূর্ণ অবস্থা ১৮৮ জন।

''আজ নতুন করে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে।
এনিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ৩০৮ জনের। 

গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত বিভিন্ন দেশের নাগরিক।
স্থানীয় নাগরিক- ২৮৩
বিভিন্ন দেশের নাগরিক- ২৫৮

 ৫ প্রদেশে আক্রান্তদের সংখ্যা।
ফারওয়ানিয়া - ১৪৫ জন
আহমদি - ১৫৩ জন
হাওয়াল্লী - ৭৯ জন
জাহরা - ১০০ জন
রাজধানী শহর - ৬৪ জন

আবাসিক এলাকায় সর্বোচ্চ আক্রান্ত।
ফারওয়ানিয়া - ৩১জন
সুলাইবিয়া- ২২ জন
জিলিব আল সুয়েখ- ৩৫ জন
আরদিয়া- ১৯ জন
ফেরদৌস- ১৮ জন
ফাহাহিল- ১৭ জন

এছাড়াও দেশটির তিনটি জায়গায় যথাক্রমে, জওয়ান রেসর্ট,খাইরান রেসর্ট ও আল-কুত বিচ্ হোটেলসহ আরো বেশ কয়েকটি ক্যাম্পে স্থানীয় ও প্রবাসী নাগরিকদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

বর্তমানে কুয়েতে ''জরুরী অবস্থা'' চলছে।
সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করতে নির্দেশ এবং খুব বেশি প্রয়োজন ব্যতীত ঘরের বাইরে বের হওয়া থেকে বিরত থাকতে নিষেধ করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

কুয়েতের সর্বত্রে (৩১ মে থেকে তিন সপ্তাহ) সন্ধ্যা ৬ টা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত ( ১২ ঘণ্টার কারফিউ)
উল্লেখ্য,  মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে কুয়েতের সর্বত্রে চলছে লকডাউন ও কারফিউ।
প্রায় তিন মাস পর ৩১ মে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধীরে ধীরে দেশটি স্বাভাবিক কাজকর্মে ফেরার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।
অন্যদিকে দেখাগেছে মাহবুলা,জিলিব,ফারওয়ানিয়া, খাইতান ও হাওয়াল্লী এলাকায় টোটাল লকডাউন।
তবে টোটাল লকডাউন এলাকার কিছু সংখ্যক স্ট্রিট ও ব্লককে এর আওতার বাইরে রাখা হয়েছে। 

টোটাল লকডাউন এর আওতার বাইরে নিম্নের ব্লক ও স্ট্রিট গুলো।
ফারওয়ানিয়া, স্ট্রিট নং- ৬০.১২০.৫২০ ও ১২৯।
খাইতান, ব্লক নং- ৪.৬.৭.৮ ও ৯

সূত্র, আরব টাইমস