দৌলতখানের নিখোঁজ সুজনকে ফিরে পেতে চান তাঁর পরিবার

দৌলতখানের নিখোঁজ সুজনকে ফিরে পেতে চান তাঁর পরিবার



মোঃ আওলাদ হোসেন জেলা প্রতিনিধি, ভোলা (দৌলতখান) ভোলার দৌলতখান উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের দুই নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ জসিম উদ্দিনের ছেলে সুজনকে পাওয়া যাচ্ছে না।পরিবার সূত্রে জানা যায় নিখোঁজ সুজন(১২)  ২০ অক্টোবর রোজ মঙ্গলবার ঢাকা থেকে দৌলতখানের উদ্দেশে তাসরিফ-২ লঞ্চে করে দৌলতখানের উদ্দেশ্য রওয়ানা দেন।লঞ্চে তাহার এক উঠার পর থেকে সুজনের আর কোন সন্ধান পাচ্ছেন না তাঁর পরিবার। সে এখন পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছে। এ বিষয় দৌলতখান থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে। শিশুটির কোন সন্ধান পাওয়া গেলে ০১৭১৯৯৪৪৯৩০ এই নম্বরে যোগাযোগ করার অনুরোধ করেছেন তার ভাই শাকিল।

ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ ( সঃ) কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল

ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ ( সঃ) কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল

মোঃ আওলাদ হোসেন, জেলা প্রতিনিধি ভোলা (প্রতিনিধি)সারা দেশব্যাপী ফ্রান্সে বিতর্কিত ম্যাগাজিন শার্লি হেবদো কর্তৃক বিশ্ব মানবতার মহান শিক্ষক মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) এর ব্যাঙ্গাত্মক কার্টুন প্রকাশ করা সহ ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাঁক্রো তা সমর্থন  দিয়ে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায়  তা প্রদর্শের প্রতিবাদে দেশব্যাপী সমাননা ইসলামী দলগুলো ও সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের উদ্যোগে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সমাবেশের অংশ হিসেবে  আজ শনিবার সকাল১০.০০ঘটিকায় চরফ্যাশনের দল, মত নির্বিশেষে সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমানগন ঐক্যবদ্ধ হয়ে শহর ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের বিভিন্ন মসজীদ থেকে মিছিলে মিছিলে শ্লোগানে শ্লোগানে একত্রিত হয়।

অথচ আল্লাহ পবিত্র কোরআনে বলেন, তোমরা ততক্ষণ পর্যান্ত পূর্নাঙ্গ ঈমানদার হতে পারবে না যতোক্ষণ না তোমার মুহাম্মদ সঃ কে তোমাদের জীবনের চাইতে অধিক ভালোবাসতে না পারবে। আর উক্ত আয়াতের মাধ্যমে প্রমাণিত বিশ্ব মানতার মুক্তির দিশারী হযরত মুহাম্মদ কে মুসলমানেরা তাদের জীবনের চেয়ে অধিক পরিমাণে ভালোবাসে। তাছাড়া আরো কোরআন হাদীসের বিভিন্ন রেফারেন্সের মাধ্যমে সুস্পষ্টভাবে দৃশ্যমান আল্লাহ রাসূল (সঃ) কে সৃষ্টি না করলে গোটা পৃথিবীর কোনো কিছু সৃষ্টি করতেন না।

মুসলমানের প্রাণের স্পন্দন, মানুষের অধিকার আদায়ে যিনি ছিলেন আপোষহীন, যার আগমনে আইয়্যামায়ে জাহিলিয়ার যুগ সোনালী যুগে পরিণত। যার সততা , নিষ্ঠা, আমানতদারিতা ও বিশ্বস্তার কারনে তৎকালীন সময়ের কাফেরেরা আল- আমীন উপাধিতে ভূষিত করেন। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, ফ্রান্স সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় ইসলামের উপর বারবার আক্রমনাত্মক মনোভাব নিয়ে ২০০ কোটি মুসলামানের প্রাণের স্পন্দন  মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) এর ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন প্রকাশ করে ধর্মীয়ভাবে ইসলামকে ছোট করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। আমরা আজ প্রতিবাদে পুরো বিশ্বের মুসলিমরা  ঐক্যবদ্ধ  হয়েছি।  ফ্রান্সের পণ্য বয়কট করে মুসলিমরা তাদের প্রতিবাদ ব্যক্ত করেছি। বাংলাদেশ সরকারের উচিত ফ্রান্সের সাথে সকল সম্পর্ক ছিন্ন করে বাংলাদেশের অবস্থান ফ্রান্স সরকারকে জানিয়ে দেয়া। অনতিবিলম্ব যদি ফ্রান্স সরকার তাদের হীনকর্মের জন্য ক্ষমা না চান তাহলে মুসলমানেরা তাদের বিরুদ্ধে দুর্বার গণআন্দোলন গড়ে তুলবে।

নাগরপুরে জাতীয় যুব দিবস উদযাপন

 নাগরপুরে জাতীয় যুব দিবস উদযাপন

ডা.এম.এ.মান্নান,টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি:মুজিববর্ষের আহ্বান,যুব কর্ম সংস্থান’ এই স্লোগান নিয়ে সারা দেশের ন্যায় টাঙ্গাইলের নাগরপুরে জাতীয় যুব দিবস ২০২০ পালিত হয়েছে ।আজ রোববার,১ নভেম্বর ২০২০ খ্রি. সকালে উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উদ্যোগে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে এ দিবসটি পালিত হয়।

 দিবসটি উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সহকারি কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুরের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, টাঙ্গাইল-৬ (নাগরপুর-দেলদুয়ার) আসনের সংসদ সদস্য আহসানুল ইসলাম টিটু।এ সময় যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. মাহাবুব আলম খানের পরিচলানায় আরো বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. হুমায়ুন কবীর, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছা. ছামিনা বেগম শিপ্রা, সদর ইউপি চেয়ারম্যান একে এম কামরুজ্জামান মনি, সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সুজায়েত হোসেন, আইসিটি কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান প্রমুখ।আলোচনার সভা শেষে যুব উন্নয়ন কর্তৃক প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ২১ জন যুবক-যুবতিদের মধ্যে ১০,৩২,০০০ টাকা ঋন প্রদান করা হয়। এ ছাড়া প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ২৫ জনের মধ্যে সনদপত্র এবং উপস্থিতিদের মাঝে ১৫০টি মাস্ক ও ১০০টি গাছের চারা বিতরন করা হয়। এ সকল কর্মসূচীতে বিভিন্ন স্তরের ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের ১৩ বছর পূর্তিতে সাতক্ষীরায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

 বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের ১৩ বছর পূর্তিতে সাতক্ষীরায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত



আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃ বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের ১৩ বছর পূর্তিতে সাতক্ষীরার সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান আহ্বান জন আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলনের প্রকাশ ঘটানো।

রোববার (১ নভেম্বর) বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের ১৩ বছর পূর্তি উপলক্ষে, সাতক্ষীরার বিজ্ঞ সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান তাঁর খাসকামরায় বিচার বিভাগ, সাতক্ষীরা আয়োজিত অনাড়ম্বর  কিন্তু আন্তরিক এক আয়োজনে জেলা জজশীপ ও ম্যাজিস্ট্রেসীর  উপস্থিত বিচারকদের উদ্দেশ্যে এই উদাত্ত আহবান জানান।এসময় তিনি আরো বলেন, "২০০৭ সালের এই দিনে বিচার বিভাগ নির্বাহী বিভাগ হতে পৃথকীকরণের কাজ শুরু হয়। বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের ফলে দেশের আপামর জনসাধারণ এর সুফল পেতে শুরু করেছে। পৃথকীকরণের মাধ্যমে যে সোনালী অধ্যায় উন্মোচিত হয়েছে, একে সোনালী রূপ দিতে হবে। গুণগত ও সংখ্যাগত উভয় দিক থেকেই এর নিশ্চয়তা দেয়া সময়ের দাবী। এ জন্য  সকল বিচারককে অগ্রণী ভূমিকা পালনে আন্তরিক ও স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে আসতে হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন,বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের মাধ্যমে যে আশার বীজ রোপিত হয়েছে, তা একদিন মহীরুহে রূপান্তরিত হবে।" তাঁর এই বক্তব্যে সহকর্মী বিচারকবৃন্দ একটি সুন্দর বিচার বিভাগ বিনির্মাণে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।আলোচনা শেষে, কেক কেটে মিষ্টি মুখ করে, বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের ১৩ তম বর্ষ উদযাপন করা হয়।

জননেতা জাহিদ হাসানের জম্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন ডা.এম.এ.মান্নান

 জননেতা জাহিদ হাসানের  জম্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন ডা.এম.এ.মান্নান

নাগরপুর প্রতিনিধি:আজ রবিবার,১ ই নভেম্বর ২০২০ খ্রি.সাবেক তুখোর ছাত্রনেতা,বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ,নাগরপুর উপজেলা শাখার সংগ্রামী সাংগঠনিক সম্পাদক, বিশিষ্ট সমাজ সেবক,মানব দরদী জননেতা মো.জাহিদুল হাসান জাহিদের শুভ জম্ম বার্ষিকীতে  মো.জাহিদ হাসানকে ডা.এম.এ.মান্নান শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা বার্তায় ডা.এম.এ.মান্নান বলেন- সাবেক ছাত্রনেতা জাহিদ হাসান জাহিদ একজন সত্যিকার অর্থে একজন দেশপ্রেমীক ও একজন আর্দশ রাজনীতিবিদ। তিনি আরও বলেন জ্বনাব জাহিদ সাহেব একজন মানবদরদী ও সমাজসেবক। তিনি কখনো অন্যায় করেন নি এবং তিনি কখনো অন্যায়কে সার্পোট করে না। জ্বনাব জাহিদ সাহেব কে রাজনীতির শিক্ষক আখ্যা দিয়ে তার জম্মদিনে  মহান আল্লাহ কাছে দোয়া পার্থনা করেছেন এবং তার শুভ কামনা করেন।

ফ্রান্সে মহানবী (সাঃ) অবমাননার প্রতিবাদে কয়রায় ইমাম পরিষদের মানববন্ধন

 ফ্রান্সে মহানবী (সাঃ) অবমাননার প্রতিবাদে  কয়রায় ইমাম পরিষদের মানববন্ধন




কয়রা(খুলনা)প্রতিনিধিঃ ফ্রান্স সরকার কর্তৃক বিশ্ব মুসলিমের কলিজার টুকরা ও প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শণ ও অবমাননা করায় তার প্রতিবাদ, শাস্তি ও ফ্রান্সের পন্য বর্জনের দাবীতে খুলনার কয়রা উপজেলা সদরে মানববন্ধন পালন করা হয়েছে। বাংলাদেশ ইমাম পরিষদ, কয়রা উপজেলা শাখার আয়োজনে পালিত এ মানববন্ধন সকাল ৮ টা ৪৫ মিনিটে শুরু হয়ে ১ ঘন্টা ব্যাপী স্থায়ী হয়। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বিপুল সংখ্যক মুসলমানরা ব্যানার, প্লাকার্ড ও ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রীর কুশপুত্তলিকা হাতে নিয়ে মানববন্ধনে অংশগ্রহন করে। একপর্যায়ে তারা কয়রা সদরের জিরো পয়েন্টে কুশপুত্তলিকা দাহ করে। মানববন্ধনে অংশগ্রহনকারী বাংলাদেশ ইমাম পরিষদ, কয়রা শাখার সভাপতি মাওলানা মো. শফিকুল ইসলাম নিজামী বলেন, ‘হয়রত মুহাম্মাদ (সাঃ) মুসলিম সম্প্রদায়ের কলিজার টুকরা। ফ্রান্স সরকার কর্তৃক হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শন ও অবমাননার প্রতিবাদে আজকের এ মানববন্ধন। এ মানববন্ধনের মাধ্যমে আমরা রাষ্ট্রীয় ভাবে এ ঘটনার প্রতিবাদ ও শাস্তির দাবী জানাই। সাথে সাথে মানবন্ধনের মাধ্যমে সরকারের কাছে ফ্রান্সের পন্য বর্জনের দাবী জানাই।’ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম বাহারুল ইসলাম বলেন, ‘ফ্রান্স সরকার কর্তৃক হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন ও অবমাননার কারনে আমি এজন মুসলিম হিসেবে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। এ ছাড়া মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ইমাম পরিষদ, কয়রা শাখার সহ-সভাপতি হাফেজ মো. মনিরুজ্জামান, সাধারন সম্পাদক মাওলানা মো. মাসুদুর রহমান, মাওলানা আশরাফুল ইসলাম,মাওলানা মো. জাকারিয়া হেসেন, মাওলানা মো. নওশাদ সালাম, মাওলানা মো. মহিনুল ইসলাম, মাওলানা মো. নিয়ামত উল্যাহ, মাওলানা মো. আইয়ুব আলী প্রমুখ।

কয়রায় জাতীয় যুব দিবসে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

কয়রায় জাতীয় যুব দিবসে  র‌্যালী ও আলোচনা সভা

 
কয়রা(খুলনা)প্রতিনিধিঃ কয়রায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালন উপলক্ষ্যে কয়রা উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, কয়রার উদ্যোগে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ১ নভেম্বর বেলা ১১ টায় র‌্যালী শেষে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এস এম শফিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভাইস-চেয়ারম্যান এ্যাডঃ কমলেশ কুমার সানা ও কয়রা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রবিউল হোসেন । এতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. আব্দুর রশিদ খান। অন্যান্যেদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার কাজী মো. মোস্তাইন বিল্যাহ, মৎস্য অফিসার এস এম আলাউদ্দিন আহমেদ, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রেশমা পারভীন, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আমির আলী গাইন, মোহা. হুমায়ূন কবীর, কয়রা মানব কল্যান ইউনিটের সভাপতি মো. আল-আমিন ফরহাদ,উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. শরীফুল ইসলাম টিংকু, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মো. সোহেল রানা সৌরভ প্রমুখ। আলোচনা শেষ যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, কয়রার পক্ষ থেকে উপজেলার ১৩ জন বেকার যুবকদের মঝে ৫ লক্ষ ৩০ হাজার টাকার চেক ঋণ হিসেবে প্রদান করা হয়।

সিরাজগঞ্জে উৎযাপিত হল কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০

 সিরাজগঞ্জে উৎযাপিত হল কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০


মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃরবি বার ৩১ অক্টোবর ২০২০ ইং তারিখে সিরাজগঞ্জ জেলার সদর থানা প্রাঙ্গনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে উৎযাপিত হল কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০। এবারের কমিউনিটি পুলিশিং ডে’র প্রতিপাদ্য ছিল ''মুজিব বর্ষের মূলমন্ত্র - কমিউনিটি পুলিশিং সর্বত্র''। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিরাজগঞ্জ জেলার সম্মানিত পুলিশ সুপার জনাব হাসিবুল আলম, বিপিএম মহোদয়। এসময় পুলিশ সুপার মহোদয় তাঁর বক্তব্যে কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমের প্রয়োজনীয়তা ও এর সুফল সম্পর্কে আলোচনা করেন এবং মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ রুখতে কমিউনিটি পুলিশিংকে আরো বেগবান করার জন্য সকলকে নিজ-নিজ অবস্থান থেকে কাজ করার আহবান জানান। অতঃপর কমিউনিটি পুলিশ কর্মকর্তাদের মাননীয় ইন্সপেক্টর জেনারেল মহোদয় কর্তৃক প্রেরিত "শ্রেষ্ঠ কমিউনিটি পুলিশিং" ক্রেস্ট ও সনদপত্র প্রদান করা হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব অধ্যাপক ডাঃ মোঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না, মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য-৬৩, সিরাজগঞ্জ-২(সদর-কামারখন্দ), প্রধান পৃষ্টপোষক, কমিউনিটি পুলিশিং জেলা সমন্বয় কমিটি, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব সৈয়দ আব্দুর রউফ মুক্তা, মেয়র, সিরাজগঞ্জ পৌরসভা, সিরাজগঞ্জ ও সদস্য সচিব, কমিউনিটি পুলিশিং জেলা সমন্বয় কমিটি এবং জনাব এ্যাডঃ বিমল কুমার দাস, প্রধান সমন্বয়ক কমিউনিটি পুলিশিং জেলা সমন্বয় কমিটি।এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের সকল সদস্য, থানার অফিসার ইনচার্জসহ বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ এবং সাধারণ জনতা।

আত্রাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে এক মহিলার মৃত্যু

আত্রাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে এক মহিলার মৃত্যু



রাজশাহী ব্যুরোঃনওগাঁর আত্রাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে এক মহিলা মৃত্যু হয়েছে। নিহত রাহেলা বেগম (৪৫) সাহাগোলা ইউনিয়নের কয়সা গ্রামের কায়েম উদ্দিন মেয়ে।ঘটনা ঘটেছে সকাল ৯টার সময় সাহাগোলা স্টেশনের দক্ষিণে সিগ্ন্যাল পোস্টের পাশে।স্থানীয় ও আত্রাই থানা সূত্রে জানা যায়, সকাল পৌঁনে ৯টার দিকে রাজশাহী হতে চিলাহাটি গামী আন্তঃনগর তিতুমীর এক্সপ্রেস সাগাগোলা স্টেশনের দক্ষিন সিগ্ন্যাল পোস্ট অতিক্রম করার সময় আত্নহত্যার উদ্দেশ্যে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দেয়। এতে তার ২পা কেটে গেলে স্থানীয়রা দ্রুত উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া পথে রাহেলার মৃত্যু হয়।এ ব্যাপারে আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তদন্ত মোজাম্মেল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে মামলা রুজু হবে৷

হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শন ও কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ

 হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শন ও কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ


মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধিঃফ্রান্সে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শন, কটুক্তি ও ইসলাম অবমাননার প্রতিবাদে মোংলায় বিক্ষোভ প্রদর্শন, মানববন্ধনসহ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার বিকেলে পৌর শহরের চৌধুরীর মোড়ে এ বিক্ষোভ ও মানববন্ধনের আয়োজন করে ইমাম পরিষদ। এ কর্মসূচীতে যোগ দিতে আসরের নামাজের পর বিভিন্ন মসজিদ থেকে মুসল্লীরা বিক্ষোভসহকারে চৌধুরীর মোড়ে জড়ো হন। হাজার হাজার মুসল্লীর উপস্থিতিতে পৌর শহর জনসমুদ্রে পরিণত হয়। এ সময় ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি ম্যাক্রোর বিরুদ্ধে বিভিন্ন শ্লোগান দেন উপস্থিত মুসল্লীরা। মানববন্ধন পরর্বতী সমাবেশ থেকে ফ্রান্সের সকল পণ্য বয়কটের ঘোষণা দেন ইমাম পরিষদের নেতৃবৃন্দরা। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন ইমাম পরিষদ নেতা হাফেজ মাওলানা রেজাউল করিম, মাওলানা আঃ রহমান, মাওলানা তৈয়বুর রহমান, মাওলানা মনিরুজ্জামান ও মুফতি মাওলানা শহিদুল্লাহ।

একতা ক্লাব এর খেলোয়ারদের মাঝে কৃষক লীগ নেতার জার্সি বিতরণ

একতা ক্লাব এর খেলোয়ারদের মাঝে কৃষক লীগ নেতার জার্সি বিতরণ



আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের মনিরামপুর উপজেলার  রাজগঞ্জ একতা ক্লাবে খেলোয়াড়দের মাঝে জার্সি বিতরণ করেন কৃষকলীগ নেতা। রবিবার বিকেলে মনিরামপুর উপজেলার কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চালুয়াহাটি ইউনিয়নের জনপ্রিয় নেতা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আবুল ইসলাম, রাজগঞ্জ মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে একতা ক্লাবের ফুটবল খেলোয়াড়দের মাঝে জার্সি বিতরণ করেন। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ও রাজগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মনিরুজ্জামান মনি, চালুয়াহাটি ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। এ বিষয়ে ক্লাবের অধিনায়ক আলমগীর হোসেন জানান, আমরা ফুটবল খেলার জন্য নতুন জার্সি পেয়ে খুশি হয়েছি। ক্রিড়া প্রেমিক কৃষকলীগ নেতা ও চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল হোসেনকে আমরা একতা ক্লাবের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই।

কুলাউড়ায় সোস্যাল কেয়ার অব নেশনের পরিচালনা পর্ষদ গঠন

কুলাউড়ায় সোস্যাল কেয়ার অব নেশনের পরিচালনা পর্ষদ গঠন


মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়ার সামাজিক অঙ্গনে ভুমিকা পালন করা উপজেলার অন্যতম বৃহৎ সামাজিক সংগঠন 'সোস্যাল কেয়ার অব নেশন'র  ৮ম মেয়াদের কমিটি গঠনের পরপরই সংগঠনটিকে আরো গচ্ছিত ভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষে প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ের সদস্যদের নিয়ে ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি পরিচালনা পর্ষদ গঠন করা হয়েছে।পরিচালনা পর্ষদে স্থান পেয়েছেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি আজিজুল ইসলাম উজ্জ্বল, সাবেক সভাপতি (২০১৪-২০১৫) সোহেল আহমেদ, সাবেক সভাপতি (২০১৫-২০১৬) জামিল আহমদ চৌধুরী, সাবেক সভাপতি (২০১৬-২০১৭) খায়রুল কবির জাফর, সাবেক সভাপতি (২০১৭-২০১৮) মোহাইমিনুল ইসলাম চৌঃ মাহিন, সাবেক সভাপতি (২০১৮-২০১৯) সৈয়দ অনিসুল ইসলাম, সাবেক সহ-সভাপতি (২০১৯-২০২০) সফি আহমেদ।জানা যায় দীর্ঘ ৭ বছর প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্যরা ধাপে ধাপে বিভিন্ন মেয়াদের কমিটিতে একেকজন সভাপতি, সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের মতো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করার পর ৮ম মেয়াদের কমিটিতে (২০-২১) নবীনদের হাতে গুরুত্বপূর্ণ পদের দায়িত্ব বন্টন করে প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্যরা পরিচালনা পর্ষদে অবস্থান নিয়ে সংগঠনের কল্যাণে কাজ করে যাবার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।এক প্রতিক্রিয়ায় সংগঠনের নবনির্বাচিত সভাপতি সালাউদ্দিন আল সালোক জানান, আমি মনে করি সোস্যাল কেয়ার অব নেশনের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্যরা কুলাউড়ার সামাজিক অঙ্গনে সকলেই একেক জন সফল সংগঠক, তাদের মেধা আর পরিশ্রমেই আমাদের সংগঠনটি কুলাউড়ায় এতো জনপ্রিয় আর বৃহৎ হয়ে উঠেছে। আশা রাখছি তারা এখন পরিচালনা পর্ষদে অবস্থান করায় তাদের সঠিক পরিচালনায় আমরা সফলতার সাথে আরো অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবো।এছাড়াও খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৩ সালে কুলাউড়া সরকারি কলেজের এইচ এস সি ২০১০ ব্যাচ এর ১০ জন বন্ধুর পরিকল্পনায় সংগঠনটির যাত্রা শুরু হয় এবং তাদের কার্যক্রম দেখে অনেকেই অনুপ্রাণিত হয়ে সংগঠনে যুক্ত হন ফলস্বরূপ বর্তমানে ৪৩ জন সদস্য নিয়ে কুলাউড়ার বিভিন্ন সামাজিক কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে এই সংগঠনটি।

মোহনগঞ্জে মাদক সহ গ্রেপ্তার -১

মোহনগঞ্জে মাদক সহ গ্রেপ্তার -১


মাদত সহ গ্রেপ্তার 


আজহারুল ইসলাম মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি  নেত্রকোনা:নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে মাদকসহ ১১মামলার আসামী মো. আবুল বাশার ওরফে বাদশা মিয়াকে (৫৬) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার বাদশার বাড়ি পৌরশহরের দেওথান গ্রামে। বাদশা একজন একজন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ পর্যন্ত অনেকবার গ্রেপ্তার করে তাকে আদালতে পাঠানো হলেও জামিন নিয়ে বেরিয়ে এসে পুনরায় মাদক ব্যববসা শুরু করে।মোহনগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান বলেন, ‘আমি এই থানায় যোগদানের পর গত ৮ মাসে তিনবার মাদকসহ তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়েছি। জামিনে বের হয়ে এসে আবার মাদক ব্যবসা শুরু করে।’ এ ঘটনায় মামলা দিয়ে রবিবার সকালে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ঝিনাইদহে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালিত

ঝিনাইদহে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালিত


ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃমুজিব বর্ষের আহ্বান, যুব কর্মসংস্থান’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে ঝিনাইদহে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়েছে। রোববার সকালে জেলা যুব উন্নয়ন কার্যালয়ে এ উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রিয়াজুল ইসলাম খান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সরকারি কেসি কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর অশোক কুমার মৌলিক, জেলা তথ্য অফিসার আবু বক্কর সিদ্দিক, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সুচন্দন মন্ডল, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি সাজেদুল ইসলাম সোম। এসময় বক্তারা, বেকার যুবসমাজকে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আত্মনির্ভরশীল ও নতুন কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোগ বাড়ানোর আহ্বান জানান। আলোচনা সভা শেষে প্রশিক্ষিত যুবদের মাঝে সনদপত্র ও ঋণ বিতরণ করা হয়।

ঝিনাইদহে কমিউনিটি পুলিশিং এ বিশেষ অবদান রাখায় পুরষ্কৃত হলেন চেয়ারম্যান লিলটন

 ঝিনাইদহে কমিউনিটি পুলিশিং এ বিশেষ অবদান রাখায় পুরষ্কৃত হলেন চেয়ারম্যান লিলটন



ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃমুজিববর্ষের মূলমন্ত্র-কমিউনিটি পুলিশিং সর্বত্র’’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে কমিউনিটি পুলিশিং ডে উপলক্ষে ঝিনাইদহে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা পুলিশের আয়োজনে পুলিশ লাইন্সে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠান শেষে কমিউনিটি পুলিশিং এ বিশেষ অবদান রাখায় সদর উপজেলার ঘোড়শাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পারভেজ মাসুদ লিলটনকে সম্মাননা স্বারক ও ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ, পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস, কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সাধারন সম্পাদক কাইয়ূম শাহারিয়ার জাহেদী হিজল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কোটচাঁদপুর সার্কেল) মোহাইমিনুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আবুল বাশার, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মিজানুর রহমানসহ অন্যান্যরা।

আশাশুনিতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালিত

 আশাশুনিতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালিত

আহসান উল্লাহ বাবলু,  আশাশুনি সাতক্ষীরা   প্রতিনিধিঃ  মুজিববর্ষের আহবান, যুব কর্মসংস্থান” এই প্রতিপাদ্যকে সমানে রেখে আশাশুনিতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়েছে। রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় দিবসটি উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভা, ক্রেস্ট প্রদান ও বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব ঋণের চেক প্রদান করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজার সভাপতিত্বে এসময় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম। উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের আয়োজনে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোসলেমা খাতুন মিলি, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ দিপন বিশ্বাস। উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা এসএম আজিজুল হক এর পরিচালনায় এসময় সরকারী কর্মকর্তা, সাংবাদিক, বিভিন্ন সংগঠন পরিচালকবৃন্দ, আত্মকর্মী ও সংগঠকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সবশেষে শ্রেষ্ঠ সংগঠক, সফল যুব ও যুব মহিলাদের মাঝে ক্রেস্ট প্রদান এবং ২৯ জন যুব ও যুব নারীদের মাঝে ১৪ লক্ষ ৩০ হাজার টাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব ঋণের চেক প্রদান করা হয়।

জাতীয় যুব দিবসে ঋনের চেক,প্রশিক্ষণ ও গাছের চারা বিতরণ

 জাতীয় যুব দিবসে ঋনের চেক,প্রশিক্ষণ ও গাছের চারা বিতরণ


জাতীয় যুব দিবসে ঋনের চেক,প্রশিক্ষণ ও গাছের চারা বিতরণ

রাজশাহী ব্যুরোঃনওগাঁর আত্রাইয়ে “মুজিব বর্ষের আহবান, যুব কর্মসংস্থান”এই প্রতিপাদ্যে জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়েছে। এ দিবস উপলক্ষে যুব ঋনের চেক, প্রশিক্ষণ ও প্রশিক্ষণ এর উদ্বোধন এবং গাছের চারা বিতরণ করা হয়েছে।সকাল ১০টায় উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অফিসের আয়োজন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ছানাউল ইসলাম এর সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এবাদুর রহমান।

যুব উন্নয়ন অফিসার ফজলুল হক এর সঞ্চলনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগম,ভাইস চেয়ারম্যান শেখ হাফিজুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নৃপেনদ্রনাথ দত্ত দুলাল, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোয়াজ্জেম হোসেন, সমাজসেবা অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম, সহকারী যুব উন্নয়ন অফিসার ইলিয়াস হোসেন আব্দুস সালাম, জহুরুল ইসলাম,আত্রাই প্রেসক্লাব সভাপতি মোঃ রুহুল আমীন, সাংবাদিক তপন কুমার সরকারসহ প্রশিক্ষক প্রাপ্ত যুবক যুবতীরা।পরে প্রশিক্ষণ শেষে ২১জন যুবক কে কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ১১লক্ষ সাত হাজার টাকার চেক ও গাছের চারা বিতরণ করা হয়।

ঝিকরগাছার বাঁকড়া মহেশপাড়া বাজার থেকে মাদক ব্যবসায়ী আটক

ঝিকরগাছার বাঁকড়া মহেশপাড়া বাজার থেকে মাদক ব্যবসায়ী আটক


আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।আজ ১লা নভেম্বর  যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার ৯নং হাজিরবাগ ইউনিয়নের মহেশপাড়া বাজেরে নিজ দোকান থেকে ৪ বোতল ফেনসিডিল ও ৫০পিচ ইয়াবাসহ দুইজন মাদক ব্যাবসায়ীকে আটক করেন বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ।

আটক কৃতরা হলেন, ঝিকরগাছা উপজেলার মহেশপাড়া গ্রামের মোঃ জোনাব আলীর ছেলে মোঃ আরিফ হোসেন (৩০), মোঃ সজিবুল রহমান মিন্টু (২৫)।এএসআই সাইফুল ইসলাম থেকে জানাযায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি মহেশপাড়া বাজিরে দীর্ঘদিন যাবত মাদক ব্যাবসা করে আসছে, মোঃ আরিফ হোসেন ও মিন্টু, খবর পেয়ে আমি সঙ্গী ফোর্স নিয়ে মোঃ আরিফ হোসেন ও মিন্টুকে ৪বোতল ফেনসিডিল ও ৫০পিচ ইয়াবাসহ আটক করি।তাদেরকে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দিয়ে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

ঘোপ পিলুখান সড়কে বিদ্যুৎ স্পর্শে যুবকের মৃত্যু

ঘোপ পিলুখান সড়কে বিদ্যুৎ স্পর্শে যুবকের মৃত্যু

যশোর জেলা প্রতিনিধিঃযশোর ঘোপ ৩ নং ওয়ার্ডের পিলু খান সড়কে(তরিকুল ইসলামের বাড়ির পাশে) বিদ্যুৎ স্পর্শে এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার সকাল সাড়ে দশটায় পিলু খান সড়কের সৈয়দা ফারজানা পারভিনের নির্মানাধীন তিনতলা বাড়িতে।নিহত রাকিব উদ্দিন মোল্লা(৩০) চৌগাছা উপজেলার ফুলসারা গ্রামের রাইচ উদ্দিন মোল্লার ছেলে।

নিহত রাকিব উদ্দিনের সাথে বিল্ডিং নির্মানের কাজে অংশ নেয়া রাজন আহম্মেদ, মোহাম্মদ টিপু, মোহাম্মদ বাবু ও আলতাফ হোসেন জানান, তিনতলা বিল্ডিংএর পলেস্তার এর কাজের জন্য বাঁশ দিয়ে ভেলা বানছিলেন রাকিব। এমন সময় তারা দেখতে পান বিদ্যুৎ স্পর্শ হয়ে সে ছটফট করছে। পরে তারা রাকিবকে উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে নেওয়ার কয়েক মিনিটের মাথায় ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের মেডিকেল অফিসার শাহিনুর রহমান সোহান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ঝিনাইদহে দুর্বৃত্তরা কৃষকের বাঁধা কপির ক্ষেত নষ্ট করছে

 ঝিনাইদহে  দুর্বৃত্তরা কৃষকের বাঁধা কপির ক্ষেত নষ্ট করছে


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃঝিনাইদহে এক কৃষকের বাঁধা কপির ক্ষেত নষ্ট করছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার রাতে সদর উপজেলার কালীচরণপুর ইউনিয়নের হাটবাকুয়া গ্রামের মাঠে কে বা কারা ক্ষতিকারক কীটনাষক দিয়ে এ বাঁধা কপির ক্ষেত নষ্ট করে দিয়েছে।

ভুক্তভোগি কৃষক শমশের মন্ডল জানান, এ বছর ৬০ শতক জমি বন্ধক নিয়ে বাধাকপির চাষ করেন তিনি। পূর্বশত্রুতার জের ধরে শনিবার রাতের যে কোন এক সময় দুর্বৃত্তরা ক্ষতিকারক কীটনাষক স্প্রে করে দেয় ওই ক্ষেতে। রোববার সকালে ক্ষেতে গিয়ে দেখতে পান তার ক্ষেতের অধিকাংশ বাঁধা কপি নষ্ট হয়ে গেছে। তিনি আরও জানান, ক্ষেতে থাকা বাধা কপি এক সপ্তাহের মধ্যে বিক্রি করতে পারতেন। এতে করে প্রায় দেড় লাখ টাকার আর্থিক ভাবে ক্ষতি গ্রস্থ হয়েছে বলে জানান তিনি।এব্যাপারে সদর থানার ওসি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে দোষিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আজ উম্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে সুন্দরবন, পর্যটকদের ভীড় করমজলে

 আজ উম্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে সুন্দরবন, পর্যটকদের ভীড় করমজলে



মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ  দীর্ঘ ৭ মাসেরও অধিক সময় ধরে বন্ধ থাকার পর আজ রবিবার থেকে পর্যটকদের জন্য উম্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে সুন্দরবন। তাই সকাল থেকে দেশের বিভিন্নস্থান থেকে আসা পর্যটকদের ভিড় জমেছে মোংলার পিকনিক কণার্রে। সেখান থেকেই বিভিন্ন ধরণের নৌযানে করে তারা যাচ্ছেন সুন্দরবন ভ্রমণে। সুন্দরবনের করমজলে সবচেয়ে বেশি ভিড় দেখা যাচ্ছে। কারণ করমজলই বনের সবচেয়ে কাছাকাছি আকর্ষণীয় পর্যটন স্পট। করমজলে যাওয়া দর্শনাথর্ীদের করোনা বিধি নিষেধ মানতে সকল ধরণের সহায়তায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছে বনপ্রহরীরা। করমজল ছাড়াও পর্যটকরা যাচ্ছেন হাড়বাড়িয়া, হিরণপয়েন্ট, কটকা, কচিখালী, সুপতি ও দুবলাসহ বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে। 


গত ১৯ মার্চ করোনা প্রাদুভার্বের কারণে বন্ধ করে দেয়া হয় সুন্দরবনে প্রবেশাধীকার। তবে স্বাস্থ্য বিধি মানাসহ নানা শর্তে আজ থেকে খুলে দেয়া হয়েছে বিশ্বখ্যাত ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবন। 


করমজল পর্যটন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা মো: আজাদ কবির বলেন, শর্ত সাক্ষেপে সুন্দরবন খুলে দেয়ার পূর্ব ঘোষণার কারণেই পর্যটকরা ভ্রমণে আসতে শুরু করেছে। সরকার ঘোষিত করোনা বিধি নিষেধ ও শর্ত মেনেই পর্যটকদের বনে ভ্রমণের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বনবিভাগের পক্ষ থেকে।  

খুলনা থানায় কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০ উদযাপন

 খুলনা থানায় কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০ উদযাপন



তুহিন রানা (আব্রাহাম) খুলনা নগর প্রতিনিধিঃমুজিববর্ষের মূলমন্ত্র-কমিউনিটি পুলিশিং সর্বত্র’-এ মূলমন্ত্রকে উপজীব্য করে অদ্য ৩১ অক্টোবর কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০ উপলক্ষে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের খুলনা থানার উদ্যোগে স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত আলোচনা সভার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম), জনাব এসএম ফজলুর রহমান; বিশেষ অতিথি ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব ফেরদৌস আলম ফরাজী ওরফে চান ফরাজী, সভাপতি, কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম, খুলনা থানা; প্রধান আলোচক সামছুজ্জামান মিয়া স্বপন, ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর, কেসিসি এবং অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জনাব মোঃ আশরাফুল আলম, অফিসার ইনচার্জ, খুলনা থানা।

এসময় খুলনা থানা এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডের কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম এর প্রতিনিধি ও সদস্যগণ-সহ সম্মানিত কাউন্সিলরবৃন্দ, গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

যশোর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদারকে বিশাল গনসংবর্ধনা

 যশোর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদারকে বিশাল গনসংবর্ধনা

মোরশেদ আলম,যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধিঃযশোর-৬ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারকে সংবর্ধনা দিয়েছে নাগরিক কমিটি।একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যশোর-৬ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক। তার মৃত্যুতে ২১ জানুয়ারি আসনটি শূন্য হয়। পরে ২৯ মার্চ এ আসনের উপনির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করে তফসিল ঘোষণা করা হলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে ২১ মার্চ ঘোষণা দিয়ে নির্বাচন স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন।

পরে গত ১৪ জুলাই এই আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। তাতে লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধানে জয় পান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার। আজ শনিবার (৩১ অক্টোবর) তার নির্বাচনে বিজয়কে ঘিরেই গণসংবর্ধনা আয়োজন করা হয়েছে।শনিবার বেলা ৩টায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়। যশোরের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যরা সংগীত পরিবেশন করেন। এরপর জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে শুরু হয় মূল অনুষ্ঠান।নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক অধ্যক্ষ সুলতান আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত শাহীন চাকলাদার এমপি বলেন, 'দীর্ঘদিন জগদ্দল পাথরের মতো আমাকে আটকে রাখা হয়েছিল। কিন্তু যশোরের তৃণমূলের মানুষ সেই পাথর সরিয়ে আজ আমাকে এই আসনে বসিয়েছেন। তৃণমূলের মানুষের কাছে আমি চিরঋণী হয়ে আছি।' তিনি সবাইকে সঙ্গে নিয়ে যশোরের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

 সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কমিটির সদস্য সচিব হারুন অর রশিদ। তিনি শাহীন চাকলাদারকে যশোর উন্নয়নের কারিগর দাবি করে বলেন, 'তার নেতৃত্বে যশোর জেলা থেকে সন্ত্রাস ও দুর্নীতি দূর করা হবে।'অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল মজিদ, যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের জেলা সেক্রেটারি ডা. কামরুল ইসলাম বেনু, ক্ষুদ্র কুটির শিল্প উদ্যোক্তা সমিতির সভাপতি সাকির আলী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের জেলা সেক্রেটারি সানোয়ার আলম খান দুলু, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অসিম কুণ্ডু, ইছালি ইউপি চেয়ারম্যান এসএম আফজাল হোসেন, মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক শাহেদা বানু শিল্পী, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি শহিদুল ইসলাম প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন গণপরিষদের সাবেক সদস্য মঈনুদ্দিন মিঁয়াজী, প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, যশোর ইনস্টিটিউটের সহ-সভাপতি কাসেদুজ্জামান সেলিম প্রমুখ।দুপুর আড়াইটার পর থেকে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে মিছিল নিয়ে দলের নেতাকর্মীরা আসতে থাকেন।সকাল থেকেই যশোর পৌরকর্তৃপক্ষ সংবর্ধনাস্থলের পাশের রাস্তাগুলোতে ব্লিচিং পাউডার মিশ্রিত পানি স্প্রে করে। প্রতিটি মোড়ে অবস্থান নিয়ে পৌরকর্মীরা আগন্তুকদের গায়ে স্প্রে করে। প্রবেশস্থলেও একই ব্যবস্থা নেওয়া হয়।সময় বাড়ার পর মানুষের উপস্থিতিও বাড়তে থাকে। একসময় টাউন হল মাঠ লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়। জনস্রোত মাঠ ছাড়িয়ে পাশের রাস্তায় গিয়ে থামে।

প্রসঙ্গত, এই গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানকে সফল করতে গত কয়েকদিন ধরে যশোর জেলায় ব্যাপক মাইকিং করা হয়। জেলাময় সাঁটানো হয় চার রঙের পোস্টার। মোড়ে মোড়ে টাঙানো হয় ফেস্টুন, ব্যানার আর বিলবোর্ড।

শৈলকুপা যৌতুকের দাবী না পেয়ে গৃহ বধুকে নির্যাতন

 শৈলকুপা যৌতুকের দাবী না পেয়ে গৃহ বধুকে নির্যাতন

সম্রাট হোসেন,  শৈলকূপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলায় যৌতুকের দাবীকৃত টাকা না পেয়ে খাদিজা খাতুন (১৯) নামে এক গৃহ বধুকে নির্যাতন পূর্বক ঘরের মধ্যে আটকিয়ে রাখা হয়েছিল বলে ঐ গৃহ বধু দাবী করেছেন।পরে জীবন বাঁচাতে সুযোগ মত ঐ ঘরের জানালা ভেঙ্গে তিনি তার বাবার বাড়িতে পালিয়ে আসেন। ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নির্যাতিতা ঐ গৃহ বধু এমনটিই বিবরণ দিয়ে এই প্রতিবেদককে জানিয়েছেন। জানা গেছে, গত ২৫ শে অক্টোবর ঐ গৃহ বধুর স্বামী সোহেল রানা (২৪) তার নিজ বাড়িতে টাইলস'র কাজ করাবে বলে স্ত্রী খাদিজাকে বাবার বাড়ী থেকে টাকা আনতে বলে। সে টাকা আনতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে বেপক আকারে মারপিট করে ঘরের মধ্যে দরজা বন্ধ করে রাখা হয়। ঘরের জানালার কাজ কমপ্লিট না থাকায় সুযোগ মত কৌশলে জানালা দিয়ে বের হয়ে আহত অবস্থায় কোনমতে প্রান নিয়ে বাবার বাড়িতে চলে আসেন তিনি।মেয়ের এই করুন অবস্থা দেখে তাৎক্ষনিক তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে এনে ভর্তি করেন বাবা ইসমাইল বিশ্বাস।পূর্বেও কারনে অকারনে তার উপর শারীরিক ও মানষিক নির্যাতন করে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে দাবী করেন খদিজার বাবা।

খাদিজার ভাষ্যমতে প্রায় বছর খানেকের বেশি হলো তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রেম ভালো বাসার সম্পর্ক হলেও তাদের পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তাদের মাঝে অশান্তি বাসা বাঁধে।এরপর তাকে সংসারে কাজের চাপ বাড়িয়ে দেওয়া হয়।এতেও তৃপ্তি না হলে মারধর করা হয়।কয়েক দফা অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে এবং ঐ বাড়িতে আর থাকবে না বলে নিজেই বাবাব্র বাড়িতে চলে আসেন খদিজা। তখন মেয়ের সুখের কথা ভেবে ও সংসারে অশান্তি লাঘব করতে অভাবের সংসার থেকে অতি কষ্টে টাকা জোগাড় করে জামাইকে দিতে বাধ্য হয়েছে খাদিজার বাবা। কিন্তু এভাবে আর কতদিন টাকা দিয়ে মেয়েকে তার স্বামীর সংসার করানো যায়। তাছাড়া মেয়ের উপর এবারের বর্বরতা যেন একেবারেই মেনে নিতে পারছেন না তিনি। তাই সন্ত্রাসী জামায়ের হাত থেকে মেয়েকে বাঁচাতে পরিত্রাণের পথ খুজছেন।খদিজা উপজেলার নিত্যানন্দনপুর ইউনিয়নের সাহবাজপুর গ্রামের মোঃ ইসমাইল বিশ্বাসের মেয়ে। অন্যদিকে স্বামী সোহেল রানা একই ইউনিয়নের বাগুটিয়া গ্রামের মোঃ জাহাঙ্গীর আলম মধু'র ছেলে।এ বিষয়ে খাদিজার স্বামী সোহেল রানার সাথে মুঠো ফোনে ঘটনার সত্যতা সম্পর্কে জানার চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করে ফোন দাতার পরিচয় জানতে চায়।ফোন দাতা পরিচয় দেওয়ার পর ব্যস্ততা দেখিয়ে উত্তর দেওয়া থেকে এড়িয়ে যান তিনি।

শৈলকুপায় জাতীয় যুব দিবস পালিত

 শৈলকুপায় জাতীয় যুব দিবস পালিত

 


শৈলকুপা প্রতিনিধিঃ১লা নভেম্বর ২০২০ ইং রবিবার “ মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার, যুব কর্মসংস্থান” প্রতিপাদ্য হিসাবকে সামনে রেখে শৈলকুপায় জাতীয় যুব দিবস পালন করা হয়েছে। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বীর  মুক্তিয়োদ্ধা এম পি আব্দুল হাই আরো উপস্থিত ছিলেন এসি ল্যান্ড পার্থ প্রতিম শীল,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহিদুন্নবী কালু,সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শামীম হোসেন মোল্লা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিলুফা ইয়াসমিন,যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান, ইউ পি চেয়ারম্যান মোঃ মতিয়ার রহমান সহ প্রমুখ।অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন দুদক শৈলকুপা উপজেলা কমিটির সভাপতি আব্দুর ওহাব।

শৈলকুপায় কৃষকের ঘরে আগুন লেগে স্বপ্ন পুড়ে ছাই

 শৈলকুপায় কৃষকের ঘরে আগুন লেগে স্বপ্ন পুড়ে ছাই

সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃপ্রতিনিধি:ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলায় এক কৃষকের রান্না ঘর থেকে আগুন লেগে পাশাপাশি তিনটি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে ঐ গরিব কৃষক পরিবারের প্রায় তিন লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি (৩১শে অক্টোবর) শনিবার উপজেলার ১০নম্বর বগুড়া ইউনিয়নে ১নম্বর ওয়ার্ডের দোহা নাগিরাট গ্রামে ঘটে বলে জানা যায়।

এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ আব্দুস সালাম মিন্টু বলেন, দোহা নাগিরাট গ্রামে আনুমানিক রাত ১টার দিকে মোঃ অকামত মোল্লার ছেলে টোকন মোল্লা'র রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুন লেগে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। টের পেয়ে ঘর থেকে বের হয়ে আগুন আগুন বলে চিৎকার করলে স্থানীয়রা ছুটে এসে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়। এ সময় তার রান্নাঘরসহ একটি বসতঘর ও তার বাবা আকামত মোল্লার একটি গোয়াল ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। পরে ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে তার পাট বিক্রয় করা নগদ ২০,০০০ টাকা ও ঘরের আসবাবপত্র সহ যাবতীয় কিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

ইউপি সদস্য আরো বলেন, রাতের অনাকাঙ্ক্ষিত এই আগুনে গরিব ঐ কৃষকের সর্বোপরি তিন লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হতে পারে বলে তিনি মনে করেন। তিনি বলেন, ভুক্তভোগির ক্ষতিপূরণের জন্য আমি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সহ উপজেলা প্রশাসনের কাছে বিষয়টি জানিয়েছি। 

স্থানীয়রা ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক টোকন মোল্লার প্রতি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, টোকন মোল্লার সবচেয়ে বড় ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে বসতঘর পুড়ে যাওয়ার কারণে। এখন ঐ পরিবারে রাত যাপন করার মতো আর কোনো ঘর নেই। এমনকি একটি কুঁড়েঘর করে থাকার মতো সামর্থ্য তার আর থাকলো না।এবিষয়ে ক্ষতিগ্রস্থ টোকন মোল্লা স্থানীয় প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসনসহ সর্বস্তরের বিত্তবান মানুষের কাছে সাহায্য কামনা করেছেন।

কুলাউড়ায় জয়চন্ডীতে আবারও গরু চুরি

কুলাউড়ায় জয়চন্ডীতে আবারও গরু চুরি

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়া উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নের গিয়াসনগর এলাকার বাসিন্দা, সাবেক ইউপি সদস্য লুৎফুর রহমান  (মেহের আলী) এর একটি বড় গরু ৩১ অক্টোবর রাতে চুরি করে নিয়ে যায় সংঘবদ্ধ চোরেরা। গত ৩-৪ দিন আগে পাশ্ববর্তী উত্তর রংগীরকুল এলাকার আনার মিয়ার একটি বলদ দিনে-দুপুরে নিয়ে যায় চোরেরা। এর সপ্তাহ খানেক আগে মেহের আলী মেম্বারের পাশের বাড়ির বারিক মিয়ার একটি বড় গাভী রাতের আঁধারে নিয়ে যায় চোরেরা। 


এভাবে প্রায় প্রতিদিনই জয়চন্ডী ইউনিয়নের কোন না কোন গ্রাম থেকে গরু চুরি হচ্ছে। দীর্ঘ দিন থেকে জয়চন্ডীতে গরু চুরির ঘটনা ঘটে আসলেও এখন পর্যন্ত এ চক্রটিকে আটক করতে সক্ষম হয়নি কেউই। মাঝে মধ্যে দু-একজন আটক হলেও আইনের ফাঁকফোকড়ে অল্প দিনেই তারা বেরিয়ে আসে এবং সেই চুরি পেশায় যুক্ত হয়। তাই ইউনিয়ন থেকে এই গরু চোর চক্রকে টেকাতে হলে প্রশাসনের দিকে না চেয়ে প্রত্যেক এলাকা থেকে একত্রিত হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

গঙ্গানন্দপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন মুস্তাফিজুর রহমান

 গঙ্গানন্দপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন মুস্তাফিজুর রহমান

 


স্টাফ রিপোর্টারঃ গঙ্গানন্দপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন মুস্তাফিজুর রহমান। যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার গঙ্গানন্দপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদটি গত ১ লা মার্চ থেকে শূণ্য ছিল আজ থেকে (১ লা নভেম্বর) থেকে পদটি পূরন হলো। যোগদান অনুষ্ঠানটি অত্র প্রতিষ্ঠানের  প্রধান শিক্ষকের অফিস কক্ষে আজ রবিবার সকাল ১০ টার সময় অনুষ্ঠিত হয়।অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন  সভাপতি আমিনুর রহমান,বিদ্যুৎসাহী সদস্য মহসীন আলী ( প্রভাষক), সদস্য বিপ্লব হোসেন, কামরুজ্জামান,জাহাঙ্গীর আলম,সামসুর রহমান,ছবি রাণী,জহুরুল ইসলাম, কামরুজ্জামান, ইতিমুদ্দৌলা প্রধান শিক্ষক খলসী বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ওয়াজেদ আলী দশপাখিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়, উত্তম কুমার দাস বালিয়া  গৌরসূটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, রেজাউল হক সহকারি প্রধান শিক্ষক, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহাজ্জাদুল ইসলাম, জহুরুল ইসলাম, আবুল  কাশেম,সাজ্জাদুল ইসলাম,আব্দুল হান্নান, লাভলী,আলমগীর হোসেন,মাহাবুব রহমান,আব্দুস সোবহান প্রমুখ।অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রফিকুল ইসলাম, অনুষ্ঠানে দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা শিক্ষক আব্দুল হান্নান। এর আগে নবনিযুক্ত প্রধান  শিক্ষক মুস্তাফিজুর রহমান উজির পুর বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে দ্বায়িত্বে ছিলেন।      

আশাশুনিতে সুশাসনের জন্য নাগরিক- সুজনের কমিটি গঠন

আশাশুনিতে সুশাসনের জন্য নাগরিক- সুজনের কমিটি গঠন


আহসান উল্লাহ  বাবলু,  আশা শুনি, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সুশাসনের জন্য নাগরিক- সুজনের আশাশুনি উপজেলা আংশিক কমিটি পুনঃগঠন করা হয়েছে। শনিবার বিকালে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় এ কমিটি গঠন করা হয়।

পুরতন কমিটির সভাপতি সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আঃ হান্নানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এস এম আহসান হাবিবের সঞ্চালনায় ১ম অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন, জেলা সুজনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শেখ হেদায়েতুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. এবিএম সেলিম, সহ-সভাপতি অধ্যাপক সুবোধ চক্রবর্তী, জি এম মুজিবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাক জি এম আল-ফারুক, পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রণজিৎ কুমার বৈদ্য, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন প্রভাষক আঃ মজিদ ও গীতা থেকে পাঠ করেন অধ্যাপক সুবোধ চক্রবর্তী। এরপর সমবেত জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে সভা শুরু করা হয়। প্রথম অধিবেশনের শেষে পুরাতন কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। 

সুজন জেলা সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক শেখ হেদায়েতুল ইসলামের সভাপতিত্বে দ্বিতীয় অধিবেশনে নতুন কমিটি গঠন করা হয়। অনুষ্ঠানে সকলের সম্মতিক্রমে সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আঃ হান্নানকে সভাপতি, আ’লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আঃ সামাদ বাচ্চুকে সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউপি’র প্যানেল চেয়ারম্যান শাহিনুর ইসলামকে সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। আগামী বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় একই স্থানে সভা আহবান করা হয়েছে। সভায় কমিটির বাকী পদে সদস্য অন্তর্ভূক্ত করে পুর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে।

পাঠশালা জবি শাখা কমিটির অনুমোদন

 পাঠশালা জবি শাখা কমিটির অনুমোদন

জবি প্রতিনিধিঃপথশিশুদের নিয়ে কাজ করা তারুণ্যনির্ভর সংগঠন ‘পাঠশালা’- এর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। কমিটিতে সভাপতি হিসেবে মনোনীত হয়েছেন আরিয়ান মাহমুদ সুমন ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়েছেন ওমর ফারুক জয়।শনিবার (৩১ অক্টোবর) পাঠশালা কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ইমতিয়াজ আহমেদ জিয়ান, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান বাবু ও পাঠশালার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস এম্বাসেডর রাজিয়া জাহান স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়।

কমিটিতে সহসভাপতি পদে রয়েছেন লাকি আক্তার ও রাজু রায়হান টুটুল। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে রয়েছেন রওনাকুর সালেহীন ও মহিমা সরকার মীম। এছাড়াও অর্থবিষয়ক সম্পাদক- হিরা সুলতানা, মহিলাবিষয়ক সম্পাদক- জয়নাবুন্নেছা, ছাত্রকল্যাণবিষয়ক সম্পাদক- মোঃ মেহরাব হোসেন অপি, প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর- আমেনা খাতুন ও মোঃ ইব্রাহিম শেখ, প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর- মনীষা তালুকদার, সেঁজুতি সাহা ও আসাদুজ্জামান সিফাত, হিউমেন রিসোর্স অফিসার- রকিবুল ইসলাম ও সদস্য হিসেবে রয়েছেন রাজিয়া আক্তার রিতু, তানজিলুর রহমান, মিথিলা দেবনাথ, রাহি আক্তার বুশরা, সাদিয়া নওশীন বিন্তি, ফাতেমা তুজ জোহরা ইমু, মোঃ ওয়াবায়দুল ইসলাম, মোঃ শিমুল হোসেন, মোহসিনা ইসলাম মীম, আয়েশা আক্তার লাবনী, শিউলী আক্তার, প্রিয়াংকা সুলতানা লামিয়া, জান্নাতুল ফেরদাউস শিমু ও ফাতেমা তুজ জোহরা চৈতি।

পাঠশালা জবি শাখার সভাপতি আরিয়ান মাহমুদ সুমন বলেন, পাঠশালার সঙ্গে যুক্ত হয়ে খুবই আনন্দিত। পাঠশালার মহৎ লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যগুলোকে সফল করার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাব। আমরা আমাদের কাজের মাধ্যমে জবি শাখাকে পাঠশালার গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে তৈরি করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাব।

সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক জয় বলেন, সারা দেশের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষার জন্য যে লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে তা পাঠশালা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার যাত্রা শুরুর মাধ্যমে তা আরও এক ধাপ প্রসারিত হলো। আমি বিশ্বাস করি তরুণেরা চাইলেই অনেক কিছু পরিবর্তন করতে পারে। জবি শাখার সকলের একান্ত প্রচেষ্টায় পাঠশালাকে আরও অনেক দূর নিয়ে যেতে পারবে বলে আমি আশা করি।পাঠশালার প্রতিষ্ঠাতা এবাদুল ইসলাম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন দেশের পথশিশুদের শিক্ষার কাজ কে আরও সদূর প্রসারিত করার জন্য ক্যাম্পাস ভিত্তিক কমিটি দেয়া হয় এবং এরই ধারাবাহিকতায় পথশিশুদের সাথে নিয়ে পাঠশালার কাজ কে আরও অগ্রসর করার জন্য পাঠশালার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সুবিধাবঞ্চিত এবং পথশিশুদের নিয়ে কাজ করার জন্য কমিটির সবাইকে এগিয়ে আসতে বলেন।

পাঠশালা কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ইমতিয়াজ আহমেদ জিয়ান, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান বাবু জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা কমিটির সকলকে শুভকামনা জানান এবং কমিটির সফলতা কামনা করেন। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার একঝাঁক তরুণদের নিয়ে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষার পথকে আরও বিস্তৃত করতে সকলকে আহবান জানান। পাঠশালার ক্যাম্পাস এম্বাসেডর রাজিয়া জাহান দায়িত্বপ্রাপ্ত সদস্যবৃন্দের প্রতি ধন্যবাদ জানান এবং পাঠশালা এর প্রোগ্রাম গুলোতে সবাইকে দায়িত্বশীল থাকার আহবান জানান।

উল্লেখ্য যে, ২০১৯ সালের ৩রা ফেব্রুয়ারী পথশিশু এবং সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্য উদ্দেশ্য নিয়ে পাঠশালা প্রতিষ্ঠিত হয়। ইতিমধ্যে বিভিন্ন সময়পথশিশু এবং সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষাসামগ্রী বিতরণ, লেখাপড়ার পাশাপাশি প্রতিভা বিকাশে সহায়তা, “হাতেখড়ি-স্কুল” প্রতিষ্ঠা, স্কুল কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে আলাদা আলাদাভবে বিভিন্ন শিক্ষামুলক অনুষ্ঠান, প্রতিযোগিতা এবং সেমিনার আয়োজন করে আসছে।

শৈলকূপায় সুইসাইড নোট ও ফেসবুকে ভিডিও বার্তা দিয়ে এক ব্যক্তির আত্মহত্য

 শৈলকূপায় সুইসাইড নোট ও ফেসবুকে ভিডিও বার্তা দিয়ে এক ব্যক্তির আত্মহত্য


সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃ শৈলকূপায় আত্মহত্যার আগে ফেসবুকে ভিডিও দিয়ে ও সুইসাইড নোট লিখে কৃষ্ণ কুমার অধিকারি (৩০)নামে এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে।কৃষ্ণ কুমার অধিকারি শৈলকূপা উপজেলার ১০ নং বগুড়া ইউনিয়নের আলফাপুর গ্রামের অমিত কুমার অধিকারির ছেলে। কৃষ্ণ কুমার অধিকারির বাবা সাংবাদিকদের জানায় যে কৃষ্ণের দ্বিতীয় স্ত্রী তার উপর মানসিক অত্যাচার করার কারনেই তার ছেলে আত্মহত্যা করেছে। আত্মহত্যার আগে সে কাগজে বিস্তারিত লিখে গেছে এবং বিশ পান করার আগে সে দুষ্টু ছেলে নামের একটি ফেসবুক আইডিতে তার মৃত্যুর কারনের ভিডিও আপলোড করেছে। তবে তার সুইসাইড নোটে কৃষ্ণের দ্বিতীয় স্ত্রী ও তার বাবা মার কারনেই সে আত্মহত্যা করছে বলে জানায়।

কৃষ্ণের বাবার সাথে কথা বলে জানা যায় যে ৫ বছর আগে কৃষ্ণ পাশের আবাইপুর ইউনিয়নের কুমিড়াদহ গ্রামে বাক প্রতিবন্ধী এক নারীকে বিয়ে করে। সেখানে কৃষ্ণের একটি মেয়ে সন্তান আছে। তারপরে প্রায় ১ বছর আগে কাউকে না জানিয়ে পাশের রতণাট গ্রামে অনার্স পড়ুয়া একটি মেয়ে কে প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে বিয়ে করে। সে এই বউয়ের সাথে মাগুরা বাসা ভাড়া করে থাকে। এই মেয়ে নাকি সন্তান সম্ভবনা ছিল। তবে কৃষ্ণের বাবা কৃষ্ণের দুই বিয়ের কথা স্বীকার করলেও খোঁজ নিয়ে জানা যায় যে কুমিড়াদহ গ্রামে বিয়ে করার আগে কৃষ্ণ আরও এক বিবাহ করেছিল। তবে সেই বউকেই সে বাড়ীতে নিয়ে আসতে পারেনি।তবে এলাকাবাসী জানায় কৃষ্ণ মুলত প্রতারণা করে ভুল বুঝিতে পরিচয় গোপন করে রতণাট গ্রামে অনার্স পড়ুয়া মেয়েটিকে বিয়ে করে। সে অষ্টম শ্রেণী পযুন্ত লেখা পড়া জানে। তারপর মেয়েটি যখন জানতে পারে যে কৃষ্ণ বিবাহিত তার একটি সন্তান আছে তখন সে তার সাথে সংসার করবে না বলে জানিয়ে দেয়। তখন সে ঐ মেয়েটিকে ফিরে পাওয়ার জন্য ইউনিয়ন পরিষদে অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ পাওয়ার পর গত বুধবার ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে মেয়ে কৃষ্ণের সাথে সংসার করতে অস্বীকার করার কারনে মেয়ের বাবা কে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করে। কিন্ত সে তার পরের বউ নেবেই নেবে। এই বউ ঘরে নিয়ে যাওয়ার জন্য এলাকার বেশ কতিপয় ব্যক্তি তার নিকট থেকে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। এখানেই শেষ নয় ঐ বউকে উঠায়ে নেওয়ার জন্য সে পাংশা এলাকা থেকে সন্ত্রাসী বাহিনি ভাড়া করে। এত কিছুর পর যখন বউ আর তার সাথে সংসার করবে না বলে জানিয়ে দেয় 

তখন সে গতকাল রোজ শুক্রবার দ্বিতীয় বউয়ের বাড়ির সামনে পথে দাড়িয়ে বিশ পান করে মোটর সাইকেল চালিয়ে বাড়ীতে এসে বাড়ির সকল কে জানায় যে সে বিশ পান করছে। বাড়ির লোক জন তাকে প্রথমে শ্রীপুর পরে মাগুরা হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে মাগুরা হাসপাতালে কৃষ্ণ মারা যায়।এই ঘটনা প্রসঙ্গে কৃষ্ণের অভিযুক্ত স্ত্রীর সাথে কথা বললে সে জানায় যে কৃষ্ণের বাড়ি আমার গ্রামের পাশের গ্রাম হলেও আমি ছোট্ট বেলা থেকে মাগুরা বসবাস করার কারনে তার সম্পর্কে কিছুই জানতাম না। তার সাথে আমার মোবাইলে সম্পর্ক হয়। তারপরে একদিন ইজিবাইকে যাওয়ার পথে সে আমাকে একটি কাগজে স্বাক্ষর করিয়ে নেয়। পরে যখন জানতে পারি যে তার বউ বাচ্ছা আছে তা গোপন করে আমাকে ফাকি দিয়ে বিয়ে করেছে। তখন তার যেহেতু বউ আছে তাই আমি তার সাথে আর সংসার করব না বলে ঠিক করি। তখন সে আমার বিরুদ্ধে ইউনিয়ন পরিষদ অফিসে শালিস দেয়। সালিশের উপস্থিত সকলে আমাকে তার ওয়ানে যেতে বললে আমি যেতে রাজি না হওয়ার তারা আমার বাবাকে ৫০ হাজার টাকা জরি মানা করে। আমরা তাউ মেনেনি। তাছাড়া আমার সাথে বিয়ের আগে সে আমাকে বলে যে আমি যদি তাকে বিয়ে না করি তাহলে সে আত্মহত্যা করবে। গ্রামের অধিকাংশ হিন্দু মুসলিম জানায় যে কৃষ্ণ খুব খারাফ প্রকৃতির মানুষ ছিল। সে গ্রামের কাউকেই পরোয়া করত না। সে মরার আগে ও গ্রামের ভাল মানুষের ফাঁসিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করল। ইউ পি সদস্য আওয়াল ইউনিয়ন পরিষদে শালিসের কথা স্বীকার করে বলে যে অভিযোগ তোঁ কৃষ্ণ নিজেই দিয়েছিল। 

তাহলে তাকে কেন ভঁয় দেখাতে হবে? সে মাদক ব্যবসার সাথেও জড়িত ছিল। শৈলকূপায় একবার তার এই সব নিয়ে সমস্যা হয়েছিল। বগুড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জানায় যে কৃষ্ণ খুব খারাপ প্রকৃতির মানুষ ছিল। তাই তাকে তার দ্বিতীয় বউকে তার হাতে তুলে দেওয়া হয়নি। এখন সে সবাইকে ফাঁসিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে। সে মুলত আত্মহত্যা করেছে। হাটফাজিল পুর পুলিশ ক্যাম্পের এস আই ফারুক হোসেন জানায় যে শুনেছি আলফাপুর গ্রামের একজন আত্মহত্যা করেছে। তাকে মাগুরা নিয়ে গিয়েছিল। তবে আমাদের নিকট কেউ অভিযোগ করেনি।এই প্রসঙ্গে জানার জন্য শৈলকূপা থানার অফিসার ইন চার্জ কে ফোন দিলে সে বলে যে আমি ব্যস্ত আছি পরে কথা বলব বলেই ফোন কেটে দেয়।