অগ্নিদগ্ধ ৭ তলা বস্তিবাসীদের পাশে দাঁড়ান

অগ্নিদগ্ধ ৭ তলা বস্তিবাসীদের পাশে দাঁড়ান

রাজধানীর মহাখালীতে ৭ তলা বস্তিতে আগুনে পুড়ে গেছে বহুঘর ও বস্তিবাসীদের স্বপ্নের আবাসস্থল। ২৩ নভেম্বর রাত আনুমানিক ১১ টা ৪৫ মিনিটে আগুনের সূত্রপাত হয়। ফায়ার সার্ভিসের ১২ টি ইনিটের প্রচেষ্টায় রাত ১২ টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্তব্যরত কর্মকর্তা শাহজাহান সিকদার জানান সর্বমোট ২০০ ফায়ার কর্মী ঘন্টাব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। যদিও এ ঘটনায় হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায় নি তবে নিঃস্ব হয়ে গেছে অসংখ্য বস্তিবাসী। আগুন নিভে গেলেও তার সাথে সাথে নিভে যায় তাদের অধরা সুখ স্বপ্ন।

মহাখালীর ৭ তলা বস্তিতে আগুনে কাশেম আলীর বসতবাড়ি ও মুদি দোকান পুড়েছে।
মহাখালীর একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্লাস ফাইভের ছাত্রী ফারিয়া।আগুন লাগায় নিজের পরিবারের সাথে বের হয়ে যাওয়ায় নিজের পড়ার বইগুলো সাথে নিতে পারেনি। ফলে পুড়ে যায় তার শিক্ষার প্রদীপটিও। পুড়ে যায় নববধূ গীতা রানীর বিয়ের বেনারসি। রাতের আধারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে মিলিয়ে যায় তাদের জীবনের আশার শেষ আলোটুকুও। সকালে সূর্য ওঠার পর দেখা যায় বসতবাড়ি ও আশেপাশের দোকানপাট কোন কিছুর অস্তিত্ব নেই। করোনাকালীন এমন একটা সংকটময় সময়ে এই অগ্নিকান্ড যেন অসহায় বস্তিবাসীদের জন্য মরার ওপর খাড়ার ঘাঁ। তাই তাদের পাশে দাঁড়ানো সুধী সমাজ তথা সামর্থ্যবানদের নৈতিক দায়িত্ব।

৭ তলা বস্তিটির ওই অংশের প্রায় ৬০ থেকে ৭০ টি দোকান পুড়ে গেছে। আগুনের ভয়াবহতা দেখে বস্তিবাসীরা এদিক ওদিক ছুটাছুটি করেও কিছু করতে পারেনি। কারন আগুন নেভানোর কোন ব্যবস্থা বস্তিতে ছিলো না। এই বিষয়টি সত্যিই আমাদের জন্য অনেক বেশি দুঃখজনক।আগুন লাগার প্রকৃত কারনও জানা যায় নি। তবে আগুন লাগার কারন উদঘাটনে আমাদের অনেক বেশি সোচ্চার হতে হবে। কেনো প্রতি বছর আমাদের দেশে নিমতলি, চকবাজার ট্র্যাজেডির মত ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটছে। শীতকাল তথা এই সময়টাতে প্রায়শই এমন দূর্ঘটনাগুলো বেশি ঘটতে দেখা যায়।বিশেষ করে বস্তিগুলোতে ঘনবসতি আর অসচেতনতার কারনে এমন ঘটনা বেশি ঘটে থাকে। এই বিষয়ে এখন সময়ের দাবী হচ্ছে সরকারের কঠোর হস্তক্ষেপ ও পদক্ষেপ গ্রহন করা। এসব ঘনবসতিপূর্ণ এলাকার বস্তিবাসীদের নিরাপদ আবাসন তথা জীবিকার ব্যবস্থা সরকারকেই করতে হবে।

মারিয়া অনি
শিক্ষার্থী, বাংলা বিভাগ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

মেধাবীদের মাঝে নগদ অর্থ প্রদান

মেধাবীদের মাঝে নগদ অর্থ প্রদান

টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি: বাংলাদেশ ছাত্র কল্যান পরিষদ,নাগরপুর উপজেলা শাখার উদ্যোগে অসহায়,দরিদ্র স্কুল,কলেজ,মাদ্রাসা পড়ুয়া মেধাবী  ছাত্রদের মাঝে পড়াশোনার উপকরণ বই,খাতা,কলম সহ প্রয়োজনীয় জিনিস কেনার জন্য নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। 
আজ রবিবার,২৯ নবেম্বর ২০২০ খ্রি.নাগরপুর উপজেলা বিপ্লবী সভাপতি ছাত্রনেতা মো.তোফায়েল আহম্মেদ এর নেত্বত্বে দিনব্যাপী মেধাবী অসহায়  ছাত্রদের মাঝে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে ।

 মেধাবী অসহায় ছাত্রদের মাঝে নগদ অর্থ প্রদান কালে উপস্হিতি ছিলেন নাগরপুর উপজেলা ছাত্র কল্যান পরিষদের বিভিন্ন পর্যায়ের নেত্ববৃন্দ।

স্বপ্নের ঢেউ সমাজকল্যাণ সংস্থা, কুলাউড়া উপজেলা শাখার কমিটি গঠন সম্পন্ন

স্বপ্নের ঢেউ সমাজকল্যাণ সংস্থা, কুলাউড়া উপজেলা শাখার কমিটি গঠন সম্পন্ন

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃ২৯ নভেম্বর রবিবার মৌলভীবাজার পৌর কনফারেন্স হলে মত বিনিময় ও কমিঠি গঠন অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা মেয়র ফজলুর রহমান সাহেব, কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক, রুকন মিয়ার পরিচালনায় কমিঠি ঘোষণা করেন সংগঠনের প্রতিষ্টাতা ও সভাপতি সৈয়দ সাহেদ আলী, উপস্থিত ছিলেন সাবেক সভাপতি, অহমেদ রনি

সাধারণ সম্পাদক, আব্দুস সামাদ আজাদ সহ মৌলভীবাজার জেলা ও বিভিন্ন উপজেলা শাখার সভাপতি সম্পাদক সহ সেচ্চাসেবীবৃন্দ। সর্বসম্মতিক্রমে জাবের হুসাইন কে পুনরায় সভাপতি ও সাঈদ আহমদ কে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করে (৪১) সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।কমিটির অন্যান্য দায়িত্বশীলবৃন্দ,

সিনিয়র সহ-সভাপতি লিমন তালুকদার, সহ-সভাপতি সামছুল ইসলাম সুমন, সহ-সভাপতি মাছুম বিল্লাহ,সহ-সভাপতি সাব্বির আহমেদ,যুগ্মসাধারণ সম্পাদক-বুরহান উদ্দিন,যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মুহিনুল ইসলাম সাব্বির, যগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহেদ আহমেদ,যগ্ম-সাধারণ সম্পাদক- আব্দুল মুমিন,সাংগঠনিক সম্পাদক-আলমগীর হোসেন,সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রেদোয়ান আহমেদ,সহ-সাংগঠনিক বাবেল আহমেদ, সহ-সাংগঠনিক আইনুল ইসলাম চৌঃ নাহিদ,অর্থ সম্পাদক- নিজাম, উদ্দিন,প্রচার সম্পাদক- মোঃরায়হান আহমেদ, সহ-প্রচার সম্পাদক আকাশ আহমেদ,সহ-প্রচার সম্পাদক মুহিবুর রহমান,দপ্তর সম্পাদক - তানিম আহমেদ,সহ-দপ্তর সম্পাদক সাইফুল আহমেদ, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক- কাউসার আহমেদ আমীর, সহ বদরুল ইসলাম পংকি,মহিলা বিষয়ক সম্পাদক-রওশনারা আক্তার রিয়া, সহ-মহিলা সম্পাদক মোছা: সানজিদা আক্তার, তথ্য ও যোগাযোগ বিষয়ক ঙসম্পাদক:হাবিবুর রহমান হোসাইন 

সহ-তথ্য ও যোগাযোগ বিষয়ক, মেহদী হাসান মালেক, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক-হাফিজ সাকিল স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক-নিপুল আহমেদ সাবলু

সহ স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক-মাহবুবুর রহমান টিটু

যুব ও শিশু বিষয়ক সম্পাদক: আরিফ ইসলাম 

*কার্যকরী সদস্য* সুমাইয়া সুলতনা,  ফেরদৌসী জান্নাত,সাদিকুর রহমান,কাইয়ুম আহমেদ,প্রীতি আক্তার, তামান্না আক্তার, রাহি চৌধরী,মুহিদ আহমেদ, সাব্বির খান, তানিম আহমেদ, জুবায়ের আহমেদ।।

প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃপ্রতিবন্ধী বিদ্যালয় সমূহের স্বীকৃতি এবং এমপিওভুক্তিকরণসহ ১১দফা দাবীতে মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী  বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে কুড়িগ্রাম প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। 

রবিবার দুপরে কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে কুড়িগ্রাম-চিলমারী সড়কে দুইঘনটা ব্যাপী মানববন্ধন করা হয়। এতে জেলার ৫০টি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রায় ৫শতাধিক শিক্ষক ও তাদের পরিবারের সদস্যরা মানববন্ধনে অংশ নেয়। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যম প্রধানমন্ত্রী  বরাবর ১১দফা সম্বলিত স্মারকলিপি হস্তান্তর করা হয়।

এসময় বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক মাহমুদুল হাসান দিনার, খায়রুল ইসলাম, রাজিয়া সুলতানা, এরশাদুল হক, মোঃ. আসাদুজ্জামান, জাহিদুল ইসলাম পলাশ, দৈনিক কুড়িগ্রাম খবরের সম্পাদক এসএম ছানালাল বকসী প্রমুখ।বক্তারা বলেন, সরকার প্রতিবন্ধিতা সম্পর্কিত সম্বলিত বেতন বিশেষ শিক্ষা নীতিমালা গেজেট আকারে প্রকাশ করেছে। কিছু প্রতিবন্ধী বান্ধব মানুষ তাদের সামর্থ অনুযায়ী বিদ্যালয় গড়ে তুলেছেন। এসব প্রতিষ্ঠানকে অনুমোদন দিয়ে সরকারকে সেবাদানকারী শিক্ষকদের পাশে দাঁড়ানোর অনুরেধ জানান তারা।

মানবিক পুলিশ সফি কুলাউড়ায় আধুনিক হাসপাতাল চাইলেন আজম জে চৌধুরীর কাছে

মানবিক পুলিশ সফি কুলাউড়ায় আধুনিক হাসপাতাল চাইলেন আজম জে চৌধুরীর কাছে


মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃসিলেটে কর্মরত মানবিক, সদা পরোপকারী বিশেষ করে খাদ্য, চিকিৎসা,  ঔষধ ও রক্ত নিয়ে মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসা পুলিশ সদস্য সফি আহমদ এবার নিজের জন্মভূমি কুলাউড়াবাসীর জন্য একটি আধুনিক হাসপাতাল নির্মাণের জন্য দাবি তুলেছেন। তিনি দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পপতি ইষ্ট কোষ্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান কুলাউড়ার কৃতি সন্তান জনাব, আজম জে চৌধুরীর কাছে এ দাবি করেছেন।তাঁর এ দাবি সম্বলিত ফেইসবুক স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলঃ

"কুলাউড়ায় একটি আধুনিক হাসপাতাল বানানো এখন সময়ের দাবি।আল্লাহ্ আমার ক্ষুদে বার্তা জনাব আজম জে. চৌধুরী সাহেবের কাছে পৌঁছে দিবেন। আমিন।
আমাদের কুলাউড়ার অসহায় মানুষের চিকিৎসার সুব্যবস্থা দানে আপনার সুদৃষ্টি একান্ত কাম্য।

এমন একটি হাসপাতাল হবে যে হাসপাতালে থাকবে সকল প্রকাশ ডায়াগনস্টিক সেন্টার,
একটি ব্লাড ব্যাংকসহ একটি আধুনিক হাসপাতালে যা যা প্রয়োজন তার সব গুলো।

বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষণ করছি আমাদের কুলাউড়ার গর্ব বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বাংলাদেশের অন্যতম শিল্পপতি জনাব আজম জে. চৌধুরী সাহেবের।
জনাব আজম জে. চৌধুরী কিভাবে আমাদের গর্ব আর তিনি চাইলেই এরকম হাসপাতাল আমাদের উপহার দিতে পারবেন তার কিছু বর্ণনা।

নিজের মেধা, মনন এবং সৃষ্টিশীল কাজের মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিতে যুগান্তকারী ভূমিকা পালন করা এক অসামান্য ব্যক্তিত্ব। শিক্ষা-সংস্কৃতি, সামাজিক উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের উন্নয়নের জন্য যিনি নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সুখ্যাতি পাওয়া বাংলাদেশের অন্যতম বরেণ্য এই শিল্পপতি নিজেকে নিয়ে গেছেন এক অনন্য উচ্চতায়। দেশের অর্থনীতির উৎকর্ষতার পাশাপাশি মানব কল্যাণেও যার ভূমিকা প্রশংসনীয়। আত্মপ্রচারবিমুখ এই ব্যক্তিত্ব নিজের মেধা ও শ্রম দিয়ে দেশের বিদ্যুৎ, গ্যাস, চা শিল্প, গার্মেন্টস ও ব্যাংকিং খাতকে অনন্য উচ্চতায় প্রতিষ্ঠিত করেছেন। নিজের এমন যুগান্তকারী প্রশংসনীয় কর্মকান্ডের জন্য জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিভিন্ন সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন তিনি। সম্প্রতি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় লজিস্টিক্স কোম্পানি ডিএইচএল এক্সপ্রেস ও দ্য ডেইলি স্টারের যৌথ আয়োজনে ১৮তম বাংলাদেশ বিজনেস অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ অনুষ্ঠানে দেশের সেরা ব্যবসায়িক ব্যক্তিত্ব হিসেবে নির্বাচিত এবং সম্মাননা পেয়েছেন স্বনামধন্য শিল্পপতি ইস্ট কোস্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রতিষ্ঠাতা আজম জে চৌধুরী।

শত ব্যস্ততার মাঝেও তিনি তাঁর জন্মভূমি কুলাউড়ার জন্য সহযোগিতার হাতকে প্রসারিত রেখেছেন প্রতিনিয়ত। দেশের কল্যাণের পাশাপাশি নিজের জন্মভূমি কুলাউড়ার শিক্ষা ও আর্থসামাজিক উন্নয়নে অনবদ্য ভূমিকা রয়েছে তাঁর। উপজেলার কাদিপুরে পিতার নামে স্থাপিত মহতোছিন আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম ও বিদ্যালয়ের অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য প্রতিনিয়ত পৃষ্ঠপোষকতা করে যাচ্ছেন তিনি। তাঁর প্রতিষ্ঠান ইস্ট কোস্ট গ্রুপ ও প্রাইম ব্যাংকের বিভিন্ন শাখায় কুলাউড়ার অনেক শিক্ষিত তরুণ-তরুণীদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছেন। ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীদের জন্য কুলাউড়ায় একমাত্র আধুনিক 'বখতুন্নেছা চৌধুরী ডায়াবেটিস হাসপাতাল' প্রতিষ্ঠা করেছেন। তিনি কুলাউড়া শহরে নিরাপত্তা রক্ষায় ও চুরি ছিনতাই রোধে ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির মাধ্যমে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা প্রতিস্থাপনের ব্যবস্থা করেছেন। যার সুফল কুলাউড়ার সর্বস্তরের মানুষ ভোগ করছেন। কুলাউড়ায় নিয়মিত ফ্রি স্বাস্থ্য ক্যাম্প আয়োজনের মাধ্যমে দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। আইন শৃঙ্খলা রক্ষার কাজে নিয়োজিত কুলাউড়া থানায় একটি পুলিশী টহল ভ্যান প্রদান করেছেন। এছাড়াও কুলাউড়ার শিক্ষা, সামাজিক ও সংস্কৃতির উন্নয়নে আজম জে চৌধুরী কাজ করে যাচ্ছেন নিরন্তর।

 দেশের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান ইস্ট কোস্ট গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান আজম জে. চৌধুরী বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় বেসরকারি ব্যাংক প্রাইম ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করেন এবং বর্তমানে তিনি এই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। একই সঙ্গে তিনি কনসলিডেটেড টি অ্যান্ড ল্যান্ডস কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেডেরও (প্রাক্তন জেম্স ফিনলে লিমিটেড) চেয়ারম্যান ও মবিল যমুনা (এমজেএল) বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং ওমেরা পেট্রোলিয়াম লিমিটেড, ওমেরা সিলিন্ডার লিমিটেড ও ওমেরা ফুয়েল লিমিটেডের পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি বাংলাদেশ এনার্জি কোম্পানিজ অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট, এলপিজি অপারেটরস এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (লোয়াব) সভাপতি, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব পাবলিকলি লিস্টেড কোম্পানিজের প্রেসিডেন্ট ও সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের পরিচালক এবং ২০১২ সাল থেকে বাংলাদেশ ওশিয়ান গোয়িং শিপ ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি কুর্মিটোলা গল্ফ ক্লাবের অডিট ও ফাইনান্স কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন। এছাড়াও তিনি গ্রীণ ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের (২০০১-২০০৫) চেয়ারম্যান ছিলেন।
আপনার সুদৃষ্টি আমাদের একান্ত কাম্য।

কুলাউড়াবাসীর কাছে অনুরোধ হাসপাতালের জন্য যদি গণসাক্ষর নিতে হয় তাহলে আমাদের কুলাউড়া অনেক মানুষই গণসাক্ষর দিতে প্রস্তুত।
তার পরেও আমাদের একটা হাসপাতাল চাই।
আমাদের বৃদ্ধ মা বাবা কে নিয়ে বিভিন্ন স্থান চিকিৎসার জন্য যাতায়াত করা অনেকটা ঝুকিপূর্ণ এমতাবস্থায় আমাদের কুলাউড়ায় একটা আধুনিক হাসপাতাল থাকলে আমরা দুঃখ কষ্ট ও ভোগান্তি থেকে মুক্তি পাবো।

জনাব আমি জানিনা আমার ক্ষুদ্র বার্তা আপনার নজরে আসবে কি না কিন্তু আমি জানি আপনিই পারবেন আল্লাহ্ হুকুমে আমাদের এমন ভোগান্তি থেকে মুক্তি দিতে। "

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী হানাদারমুক্ত দিবস আজ

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী হানাদারমুক্ত দিবস আজ


মোঃআকাশ সরকার

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ


 ১৯৭১ সালের এই দিনে (২৯ নভেম্বর) মুক্তিবাহিনী ও ভারতীয় বাহিনীর প্রবল আক্রমণে পরাজিত পাকবাহিনী নাগেশ্বরী ছেড়ে যেতে বাধ্য হয়।


২০ নভেম্বর উপজেলার রায়গঞ্জে মুক্তিবাহিনী ও ভারতীয় বাহিনীর প্রবল আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্ত পাকবাহিনীর ২৫ পাঞ্জাব রেজিমেন্ট পশ্চাদপদসরণ করে নাগেশ্বরীর হাসনাবাদ ইউনিয়নের দক্ষিণ ব্যাপারীহাটে শক্ত ডিফেন্স গড়ে তোলে।


মুক্তিবাহিনী ও ভারতীয় বিএসএফের ১২ রাজপুতনা রাইফেলস সংগঠিত হয়ে ২৮ নভেম্বর রাতে তাদের উপর সাঁড়াশি আক্রমণ চালায়। পরাজিত পাকি সৈন্যরা ২৯ নভেম্বর ভোরে দক্ষিণ ব্যাপারীহাট ছেড়ে কুড়িগ্রামে পালিয়ে যায়। হানাদারমুক্ত হয় নাগেশ্বরী।

মিথ্যা মামলার বিরুদ্ধে চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম (বাবু) এর সংবাদ সম্মেলন

মিথ্যা মামলার বিরুদ্ধে চেয়ারম্যান  জামিরুল ইসলাম (বাবু) এর সংবাদ সম্মেলন


ফিরোজ কায়সার //কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃকুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার ৯ নং রিফাতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু (২৯ শে ডিসেম্বর- ২০২০) রবিবার দুপুর ১ টার সময় রিফাতপুর ইউনিয়ন পরিষদের নিজ কার্যালয় সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য দিয়ে বলেন। ২০১৯ / ২০২০ অর্থ বছরের ১০১ টি ভি,জি,ডি কার্ডের মধ্যে ভুল বশত পূর্বের অর্থ বছরের ৪ জন সুবিধাভোগী নাম দ্বিতীয় বার আশায় উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার নির্দেশনা মোতাবেক ৪ জনের নাম কর্তন করে নতুন ৪ জনের নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

এই ৪ টি কার্ডে পরিবর্তন করেন ১। আব্দুর রাজ্জাক মেম্বার এর দেওয়া মর্জিনা খাতুন এর নাম পরিবর্তন করে রুবেলা খাতুনের নামে অন্তর্ভুক্ত করেন, ২। মানিক হোসেন মেম্বার এর দেওয়া, নিলুফা খাতুন এর নাম পরিবর্তন করে নাহারা খাতুন এর নামে অন্তর্ভুক্ত করেন, ৩। আব্দুর সবুর ছবির মেম্বার এর দেওয়া, সুকিলা খাতুন এর নাম পরিবর্তন করে রুবিনা খাতুনের নামে অন্তর্ভুক্ত করেন ৪। আমার দেওয়া মাছুরা খাতুন এর নাম পরিবর্তন করে কমেলা খাতুন এর নামে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে।

পরিবর্তন করা নামের কার্ডের মধ্যে মানিক মেম্বারের দেওয়া নাহারা এর নামের কার্ড নিয়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয় এবং আব্দুর সবুর ছবির মেম্বার এর দেওয়া রুবিনা খাতুনের কার্ড নিয়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হলে আমি সংশ্লিষ্ট মেম্বার সাহেব কে বিষয়টি নিষ্পত্তির নির্দেশনা প্রদান করে সংশ্লিষ্ট মেম্বার আব্দুর সবুর ছবির, বিষয়টি গুরুত্ব না দিয়ে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন আমি খোঁজ নিয়ে জানতে পাই আব্দুর সবুর ছবির মেম্বার, রুবিনা খাতুন এর নামে দেওয়া ভি,জি,ডি কার্ডে সংশোধনের করলেও তার ভাগিনা ব্যক্তিগত কাজের লোক, শীতলাইপাড়া, কামরুল ইসলাম উক্ত চাল উত্তোলন করে খাচ্ছেন।

অথচ আমি উক্ত মেম্বার আব্দুর সবুর ছবির এর অপরাধের দায়ভার বহন করছি আমি নির্দোষ ও গভীর চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছি এই সংক্রান্ত বিষয়ে আমার বিরুদ্ধে চাল আত্মসাতের মামলা হয়েছে আমি বর্তমানে বিজ্ঞ আদালতে জামিন আছি ও মামলাটি দৌলতপুর থানায় তদন্তাধীন আছে আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ মামলাটির তদন্ত করে প্রকৃত অপরাধীদের মুখোশ উন্মোচিত হবে সঠিকভাবে তদন্ত হলে আমি অবশ্যই এই অপবাদ ও মামলা থেকে অব্যাহিত পাবো বলে আশা করছি। মা

নবীনগর শীতার্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

নবীনগর শীতার্থদের মাঝে  শীতবস্ত্র বিতরণ

এস.এম অলিউল্লাহ ব্রাক্ষণবাড়িয়া প্রতিনিধি:শীতের তীব্রতা দিন দিন বেড়ে চলছে, গরিব ও হতদরিদ্র মানুষ গুলো শীতের আগমনে চিন্তিত! সেসকল শীতার্থদের কথা চিন্তা ভাবনা করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলার সলিমগঞ্জ ইউনিয়নের কাদৈর গ্রামে ২৯/১১/ রবিবার  বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোঃ আবু মুসার নিজস্ব অর্থায়নে দুইশত(২৫০) হতদরিদ্র শীতার্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। 

শীত বস্ত্র বিতরণ কালে উপস্থিত ছিলেন সলিমগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর হোসেন। মোহাম্মদ হামিদ মিয়া বেপারী, মোঃ হুমায়ূন কবির,শ্রীঘর বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মোতালিব (মাখন), মজিবুর রহমান, রেজাউল করিম,মোঃ আবু হানিফ,  সাদ্দাম হোসেন,মোঃ মাঈনুল কবির,নরুল ইসলাম সহ প্রমুখ।

 সে সময় বক্তারা বলেন শীতার্থদের কথা চিন্তা ভাবনা করে আজ আবু মুসা যে উদ্যোগ নিয়েছে তা অবশ্যই প্রশংসনীয়। আমরা যদি প্রত্যেকে নিজ নিজ উদ্যোগে শীতার্থদের কথা চিন্তা ভাবনা করে তাদের পাশে দাঁড়াই তাহলে সমাজে আমাদের কোনো ভাই এবং বোনকে শীতে কষ্ট করতে হবেনা।
 সমাজের বিত্তবানদের উদ্দেশ্যে বলেন আসুন আমরা সবাই অসহায় হতদরিদ্রদের পাশে দাঁড়াই এবং একটি সুন্দর সমাজকে গড়ে তুলি।

এবং বর্তমানে যেহেতু করোনাকালীন সময় আমরা অতিবাহিত করছি, সেহেতু সকলে সচেতন থেকে পরিবারের সবাইকে মাস্ক ব্যবহার করার ব্যাপারে সচেতন করি। এবং ঘরের বাইরে গেলে যাতে সবাই মাস্ক ব্যবহার করে এই ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করি।

ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়

ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়


মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ  শনিবার পশ্চিমপাড়া সরকারী প্রাঃ বিদ্যালয় মাঠে বগুড়া গাবতলীর দক্ষিনপাড়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। দক্ষিনপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইনতাজ উদ্দিন ব্যাপারীর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগের নেতা এ.পি.পি এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক গোলাম রহমান মুকুল, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আইনুর রহমান, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রায়হান কবির সাধন, সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদুল হক ভূষ্টা, প্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট ওয়াহিদুল ইসলাম পিন্টু, যুবলীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ হাসান রানা।

আরো বক্তব্য রাখেন আ’লীগ নেতা আনারুল ইসলাম, আমিনুর রহমান, মোস্তাফিজার রহমান, জালাল উদ্দিন, ইউপি সদস্য সেকেন্দার আলী, কৃষকলীগ নেতা জিন্নাতুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা সজিব হোসেন প্রমূখ। শেষে সর্বসম্মতিক্রমে দক্ষিনপাড়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে আইয়ুব আকন্দ’কে সভাপতি এবং ইসমাইল হোসেন’কে সাধারন সম্পাদক করে ৫১সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।

পেশাজীবি গাড়ী চালকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ কর্মশালা

পেশাজীবি গাড়ী চালকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ কর্মশালা



সবুজ হোসেন বগুড়াঃ চালালে গাড়ী সাবধানে বাঁচবে সবাই প্রানে” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বগুড়ায় দুইদিন ব্যাপি পেশাজীবি গাড়ী চালকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার সকালে শহরের তেলিপুকুর মোটর শ্রমিক ড্রাইভিং স্কুলে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি বগুড়া জেলা শাখার আয়োজনে এবং জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।

২০০ জন চালকদের মাঝে প্রশিক্ষন দেয়া করা হয়। কর্মশালায় চালকদের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন বিআরটিএ বগুড়ার মোটরযান পরিদর্শক এস. এম সবুজ।

তিনি বক্তব্যে বলেন, একজন চালককে গাড়ীর চালানো সম্পর্কে সব ধরনের অভিজ্ঞতা ও কৌশল থাকতে হবে। তবেই সে দক্ষ চালক হিসিবে গণ্য হবে। দুর্ঘটনা এড়াতে এবং চালকদের দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিআরটিএ সঠিকভাবে প্রশিক্ষন দিয়ে যাচ্ছে। তিনি চালকদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, ট্রাফিক আইন, সাইন/সিগনাল, পুলিশের নির্দেশ মেনে চললে দূর্ঘটনা থেকে ঝুকিঁমুক্ত থাকবেন। বিআরটি কর্তৃক কাগজপত্র সম্পূর্ণ সঠিক রাখবেন।

এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তিনি দুর্ঘটনা এড়াতে সকল চালকদের সাবধানতার সাথে গাড়ী চালানের পরামর্শ দেন। এতে উপস্তিত ছিলেন বিআরটিএ বগুড়ার সহকারি মোটরযান পরিদর্শক-২ মো. হাসান, সদর ট্রাফিক পুলিশ ফাঁড়ির টিআই সফিউল ইসলাম, সেলিম হাসান, মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যকরী সদস্য আলহাজ্ব ইউনুছ আলী লয়া প্রমূখ।

খুলনায় মাস্ক পরিধান না করায় ১৯৬৭০ টাকা জরিমানা ও আটক ৭ জন

খুলনায় মাস্ক পরিধান না করায় ১৯৬৭০ টাকা জরিমানা ও আটক ৭ জন


তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা নগর প্রতিনিধিঃ
সূত্র মতে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাব্য দ্বিতীয় ওয়েভ মোকাবেলার প্রস্তুতি হিসেবে আজ ২৯ নভেম্বর, সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের নির্দেশে নগরীর ডাক বাংলো এবং নিরালা আবাসিক এলাকায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালিত হয়। মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব দেবাশীষ বসাক এবং জনাব তাহমিদুল ইসলাম। এছাড়া উপজেলাসমূহে উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি)-গণ নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। 

মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে মাস্ক সাথে না থাকায় এবং যথাযথভাবে মাস্ক পরিধান না করায় ২৯টি মামলায় ২৯ (ঊনত্রিশ) জনকে মোট ১৯,৬৭০/- (ঊনিশ হাজার ছয়শত সত্তর) টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। 'সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮' এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক এসব জরিমানা করা হয়। 

সম্প্রতি করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় গত ০৮ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখের জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভার সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে ০৯ নভেম্বর, ২০২০ তারিখ থেকে জেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থা গ্রহণ করে। 

মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন এপিবিএন এবং উপজেলাসমূহে স্ব-স্ব থানা পুলিশের সদস্যগণ। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে জেলা প্রশাসনের এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

লোহাগড়ার পল্লী থেকে এক সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

 লোহাগড়ার পল্লী থেকে এক সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

মোঃ আজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার নড়াইল।।নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের শারুলিয়া গ্রামের সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার করেছেন লোহাগড়া থানার এএসঅাই তপন কুমার।পুলিশ সূত্রে জানা যায়,শারুলিয়া গ্রামের মৃত কলমদার খানের ছেলে নবীর হোসেন (২৮) পেনাল মোত্তাব (৪০৬) দোষী সাব্যস্ত হয়ে (১ বছর) ১ মাস পেনাল মোত্তাব  (৪১৭) দাঁড়ায় দোষী সাব্যস্ত করে (০৬) মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেয় অাদালত। এএসআই তপন কুমার বলেন অাসামি পলাতক ছিলো ২৯/ নভেম্বর ২০২০ তারিখ : রবিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে  অভিযান চালিয়ে তাকে অাটক করতে সক্ষম হই। এরপর আসামিকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।

যে কোন মূহুর্তে নির্বাচনে বিজয়ের লক্ষ্যে কাজ করছি-মতবিনিময় সভায় বক্তারা

যে কোন মূহুর্তে নির্বাচনে বিজয়ের লক্ষ্যে কাজ করছি-মতবিনিময় সভায় বক্তারা

রিয়াজুল করিম রিজভী,চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধানঃডিসেম্বরের প্রথমার্ধেই চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের প্রত্যাশা নিয়ে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে মতবিনিময় সভায় মিলিত হচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

এরই অংশ হিসেবে ২৮ নভেম্বর বিকালে ১৬নং চকবাজার ওয়ার্ডের দলীয় নেতাকর্মী, কেন্দ্র পরিচালনা কমিটি ও সুধীজনদের নিয়ে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, যে কোন মূহুর্তে নির্বাচনের তারিখ ঘোষনা হলেই আমরা বিজয়ী হব ইনশাআল্লাহ। সে লক্ষ্যেই আমরা নগর ব্যাপী ধারাবাহিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। জনগন আমাদের সাথে আছে, তাদেরকে নিয়েই আমরা মুক্তি, বিজয়, গণতন্ত্র ও উন্নয়নের প্রতিক নৌকার বিজয় নিশ্চিত করব। এ ক্ষেত্রে ওয়ার্ড, ইউনিট ও কেন্দ্র কমিটির নেতা কর্মীরা গণমানুষের সাথে আমাদের সেতু বন্ধন হিসেবে কাজ করছে। 

আমরা দেখছি, একজন প্রার্থী বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে জনতার সাড়া না পেয়ে পরাজয়ের কথা ভেবে উল্টা পাল্টা মন্তব্য করছেন। নির্বাচন বয়কটের কথা বলছেন। এসব বলে পরাজয় ঢাকার চেষ্টায় কোন লাভ হবে না। গনতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নির্বাচন হবে, নৌকার বিজয় হবে। আপনারাও নৌকায় ভোট দিয়ে বিজয়ের গৌরবে যুক্ত হোন।

সভায় প্রধান বক্তা বক্তব্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ গণমানুষের সংগঠন। জনগনকে সাথী করে আওয়ামী লীগের পথ চলা। এটা প্রমানিত সত্য যে, আওয়ামী লীগের বিজয় মানে স্বাধীনতা, গনতন্ত্র, উন্নয়ন আর সমৃদ্ধি। তাই আওয়ামী লীগ ও নৌকার বিজয় মানে জনতার বিজয়। ষড়যন্ত্র আর ক্যু এর মাধ্যমে ক্ষমতায় আসা কোন ব্যক্তির অভিপ্রায় মেটাতে গড়ে তোলা দলের প্রতিনিধিদের মানুষ প্রত্যাখ্যান করে চলেছে। তারা এখন নির্বাচন বাদ দিয়ে আওয়ামী লীগ ও প্রশাসনকে গনতন্ত্রের ছবক শোনাতে ব্যস্ত হয়েছে। উল্টাপাল্টা মন্তব্য বাদ দিয়ে নিয়ম মেনে নির্বাচনে আসতে হবে, নিয়ম মেনে মানুষের কাছে যেতে হবে। এটাই গনতন্ত্র।

চকবাজার ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আমিনুল হক রন্জুর সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক মোজাহেরুল হক চৌধুরীর সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন মুজিবুর রহমান রাসেল, হাজী সেলিম রহমান, নুরুল আলম সিদ্দিকী, আবুল মাসুদ। 

সভায় উপস্থিত ছিলেন সেলিম চৌধুরী, এড. নোমান চৌধুরী, মঞ্জুর মান্নান, শফিকুল আলম,  রহমতুল্লাহ স্বপন, কাউন্সিলর পদপ্রার্থী গোলাম হায়দার মিন্টু, মহিলা কাউন্সিলর পদপ্রার্থী রুমকি সেন গুপ্ত, মুজিবুর রহমান, মাহফুজুল বারী খসরু, ফজলুল হক কাজল, একরাম হোসেন, দেলোয়ার হোসেন,  এড. দিদারুল আলম,  জিন্নাত সেলিম, হাসিনা আকতার টিনু, সেলী বড়ুয়া, শিল্পী বড়ুৃয়া, সাজেদা বেগম, কাজল প্রিয় বড়ুৃয়া, আকতার আহমদ, আবদুর রহিম, সালাহউদ্দিন, শাজাহান হামিদী, হাজী আনিসুল ইসলাম সহ ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ, ইউনিট আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ এবং কেন্দ্র নির্বাচন পরিচালনা কমিটির  আহবায়ক-সচিববৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

জানমাল রক্ষা ও জলবায়ু সুবিচারের দাবিতে কয়রায় এশিয়া ক্লাইমেট র‌্যালী

 জানমাল রক্ষা ও জলবায়ু সুবিচারের দাবিতে কয়রায় এশিয়া ক্লাইমেট র‌্যালী

 মোহাঃ ফরহাদ হোসেন কয়রা ((খুলনা)) প্রতিনিধিঃঅরক্ষিত উপকূলীয় এলাকার জানমাল রক্ষা ও জলবায়ু সুবিচারের দাবিতে খুলনার কয়রাতে এশিয়া ক্লাইমেট র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে।শনিবার (২৮ নভেম্বর) কয়রার উত্তর বেদকাশী  ইউনিয়নের পাতাখালী কাটকাটা বেড়িবাঁধের উপর এই র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।

ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস এর খুলন জেলা সমন্বয়কারী মাহমুদুল হাসান বাদশাহ'র তত্ত্বাবধানে ও ব্যবস্থাপনায় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী এবং পরিবেশ ও জলবায়ু কর্মীরাসহ অর্ধশতাধিক তরুণ-তরুণী এই মানববন্ধনে অংশ নেন।ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস এর খুলনা জেলা সমন্বয়কারী মাহমুদুল হাসান বাদশাহ বলেন, বৈশ্বিক জলবায়ু পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপুর্ণ দেশগুলোর একটি। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে এই ঝুঁকি দিন দিন বাড়ছে। এশিয়ার বিভিন্ন দেশসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন উপকূলীয় অঞ্চল অরক্ষিত থেকে যাচ্ছে যুগের পর যুগ। এশিয়া ক্লাইমেট র‌্যালির মাধ্যমে অরক্ষিত উপকূলীয় এলাকার জানমাল রক্ষা ও জলবায়ু সুবিচারের দাবি জানানো হয়েছে।

নড়াইলে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে ধান বীজ বিতরণ

নড়াইলে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে ধান বীজ বিতরণ

মোঃ আজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃনড়াইল সদর উপজেলায় ছয় হাজার কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে হাইব্রিড বোরো ধান বীজ বিতরণ করা হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সদর উপজেলার আয়োজনে রোববার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা। প্রত্যেক কৃষককে বিনামূল্যে দুই কেজি করে বোরো ধান বীজ প্রদান করা হয়।কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর নড়াইলের উপ-পরিচালক দীপক কুমার রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন কৃষিবিদ অনুজ কুমার বিশ্বাস, সদর উপজেলা ইউএনও সালমা সেলিম, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম, সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার কৃষ্ণা রায়সহ অনেকে।

নগরকান্দায় আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে আওয়ামী লীগের কর্মী সভা

নগরকান্দায় আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে আওয়ামী লীগের কর্মী সভা




ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের নগরকান্দা পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে আওয়ামী লীগের কর্মী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

সোমবার বিকাল তিনটায় নগরকান্দা উপজেলা কেজি স্কুল মাঠে কর্মী সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

কর্মী সভায় সভাপতিত্বে করেন ইসরাফিল মাতুব্বর, 

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর  পি এ নগরকান্দা পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আজাদ হোসেন, নগরকান্দা পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নিমাই চন্দ্র সরকার, নগরকান্দা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দেলোয়ার হোসেন দুলু,নগরকান্দা পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এম আই আজাদ, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান কেরামত,উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি সহিদুল ইসলাম সুরুজ, পৌর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল মাতুব্বর, সেচ্ছা সেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলামিন,যুবলীগ নেতা জাকির হোসেন পক্ষি,যুবলীগ নেতা সাহিদ,যুবলীগ নেতা আনোয়ার, যুবলীগ নেতা, রিপন মিয়া,প্রমুখ 

কর্মী সভায় বক্তারা বলেন লাবু চৌধুরীর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ কে শক্তি শালী করে রাখবো

মিথ্যা মামলার প্রতিকার চেয়ে প্রবাসী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

মিথ্যা মামলার প্রতিকার চেয়ে প্রবাসী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন


মিরসরাই প্রতিনিধিঃরোকসাানা আক্তার প্রকাশ ঢাকাই সুন্দরী প্রতারক লিলির মিথ্যা মামলার প্রতিকার চেয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে মিরসরাইয়ের প্রবাসী পরিবার। রবিবার (২৯ নভেম্বর) সকাল ১১টায় মিরসরাই প্রেসক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এসময় প্রবাসী পরিবারের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন, তার পিতা আবুল কালাম, বড় ভাই রেজাউল করিম, বোন বিবি রহিমা ও ভগ্নিপতি জসিম উদ্দিন।

সংবাদ সম্মেলনে ভূক্তভোগী পরিবারের পক্ষে রেজাউল করিম লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমার ছোট ভাই ইউনুসের সাথে রোকসানা আক্তার প্রকাশ ঢাকাই সুন্দরী লিলি তার স্বামী জাকির হোসেনসহ ঢাকার একটি শক্তিশালী প্রতারক চক্র লিলির সাথে আমার ছোট ভাইয়ের সাথে কৌশলে পারিবারিক সখ্যতা তৈরি করে ওই সখ্যতাকে কেন্দ্র করে আমার ভাইয়ের কাছ থেকে কৌশলে ২০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এছাড়া  আরো ১৫ লক্ষ টাকা দাবি করে সেই টাকা না দেওয়ার করনে প্রতারক লিলি ও তার চক্র ভূয়া কাবিন বানিয়ে আমার ভাই ও আমাদের পরিবারের সকলের বিরুদ্ধে একের পর এক হয়রানি মূলক মামলা করে আমাদের স্বাভাবিক জীবন বিষণœ করে তুলেছে। রোকসানা আক্তার প্রকাশ ঢাকাই সুন্দরী লিলি একজন সংঙ্গ বদ্ধ প্রতারক চক্র দলের সদস্য। তার পেশা প্রবাসী যুবকদের ফেইসবুকে কৌশলে বন্ধু তালিকায় যুক্ত হয়ে যৌন আবেগ কে কাজে লাগিয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে তাদের সর্বস্ব হাতিয়ে নেওয়া। সম্পর্কের প্রথম দিকে প্রতারক সদস্য লিলি যুবক দের কাছে নিজেকে পিতা-মাতাহীন এতিম অসহায় নারী হিসেবে প্রকাশ করে মানুষের কোমল মনে স্থান করে নেয়। কিন্তু সময়ের ব্যবধানে বেরিয়ে আসে তার আসল চরিত্র। আমার প্রবাসী ভাই ইউনুস কে চলে বলে কৌশলে আর্থিক লাভের লোভ দেখিয়ে তার স্বামীর ব্যাবসায়ের অংশাদার করার কথা বলে ২০ লক্ষ  টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। পরবর্তীতে আমার প্রবাসী ভাই ইউনুস যখন বুঝতে পারে লিলি ও তার স্বামী একটি প্রতরক চক্রের সদস্য। তখন আমার ভাই প্রতারক লিলির থেকে দূরে সরে যেতে চাইলে লিলি ও তার চক্রের সদস্যরা আমার ছোট  ভাইয়ে কাছে গোপন ভিড়িওর ভয় দেখিয়ে আরো ১৫লক্ষ টাকা দাবি করে। ১৫ লক্ষ টাকা না দিলে প্রতারক লিলি আমার ভাইয়ের সাথে লিলির বিয়ে হয়েছে মর্মে দুটি ভূয়া কাবিন তৈরি করে আদালতে দাখিল করে। দেন মোহর ও বরণ পোষণ বাবদ একাদিক দাবি মামলা করে ঢাকার একটি আদালতে। প্রতারক লিলি মামলার নথি হিসেবে আদালতে জমাকৃত প্রথম কাবিন টি আদালতের নির্দেশে নিকাহস রেজিষ্টারের সত্যতা যাচাই করলে নিকাহ রেজিষ্টার কর্তৃক ভূয়া কাবিন বলে প্রমাণিত হয়। প্রথম কাবিন ভূয়া প্রমাণিত হওয়ার পর প্রতারক লিলি ও তার চক্র পুনরায় আরেকটি ভূয়া কাবিন তৈরি করে আদালতে দাখিল করে যা এখনো তদন্তাদিন রয়েছে।  আমরা আশা করছি উক্ত কাবিন ও ভূয়া বলে প্রমাণিত হবে। 

১৫ লক্ষ টাকা দিতে রাজি না হলে ইউনুসকে আসামি করে ভরন পোষণ ও দেনমোহর বাবদ প্রায় ২০ লাখ টাকা চেয়ে ৩য় সিনিয়র সহকারী জজ ও পারিবারিক আদালত, ঢাকা বরাবর মামলা করে। এছাড়া পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের হয়রানি করতে সকল সদস্যদের আসামী করে পারিবারিক সহিংসতা(প্রতিরোধ ও সুরক্ষা) আইনে মামলা করে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে। এতে আসামী করা হয়েছে ইউনুসসহ বৃদ্ধ পিতা-মাতা, বোন, জামাতাসহ সাত জনকে। এছাড়া চট্টগ্রাম আদালতেও একটি মামলা করেছে যা আমাদের অজান্তেই আমাদের নামে ওয়ারেন্ট হয়। তার হয়রানি থেকে আমরা পরিত্রাণ চাই। আদালতে  ভূয়া প্রমাণিত কাবিনের বিরুদ্ধে আমরা চট্টগ্রাম আদালতে প্রতারণা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

ইউনুস পরিবারের অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে ইমোতে অডিও বার্তায় রোকসানা আক্তার লিলি সাংবাদিকদের বলেন, প্রতারক আমি না ওরা? সব ডকুমেন্টস আছে কি ডকুমেন্টস চাই আপনাদের। কোর্ট ওকে রায় দেয় নাই, যে ও প্রমাণ করেতে চাইতে আমি ভূয়া। ভূয়া ও প্রমাণ হবে, এ দেশে আইন এতো সোজা না। ও আমার সাথে চিট করছে, আমার কাছ থেকে টাকা নিয়েছে।

বেতাগী উপজেলার এ বি এম গোলাম কবির সহ ২৫ পৌরসভায় নৌকার মাঝি হলেন যারা

বেতাগী উপজেলার এ বি এম গোলাম কবির সহ ২৫ পৌরসভায় নৌকার মাঝি হলেন যারা


শিপনঃ বরগুনা জেলার বেতাগী পৌরসভাসহ ২৫ টি পৌরসভায় আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকার মাঝিদের চূড়ান্ত তালিকা করা হয়েছে।  গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এসব পৌরসভার প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা হয়।

বরগুনা জেলার বেতাগী থানা আওমিলিলীগ সভাপতি ও বর্তমান মেয়র এ বি এম গোলাম কবির সহ ২৫ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা :

 পঞ্চগড় সদরে জাকিয়া খাতুন, ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জে কশিরুল ইসলাম, দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে খাজা মইন উদ্দিন, রংপুরের বদরগঞ্জে মোঃ আহাসানুল হক চৌধুরী, কুড়িগ্রাম সদরে মো. কাজিউল ইসলাম, রাজশাহীর পুঠিয়ায় মো. রবিউল ইসলাম ও কাটাখালীতে মোঃ আব্বাস আলী, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে মনির আক্তার খান তরু, পাবনার চাটমোহরে শাখাওয়াত হোসেন সাখো। কুষ্টিয়ার খোকসায় আল মাসুম মুর্শেদ,

চুয়াডাঙ্গা সদরে রিয়াজুল ইসলাম, খুলনার চালনায় সনৎ কুমার বিশ্বাস, পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় আ. বাকের মোল্লা, বরিশালের উজিরপুরে মো. গিয়াস উদ্দিন ও বাকেরগঞ্জে মো. লোকমান হোসেন ডাকুয়া, ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে এসএম ইকবাল হোসেন সুমন, নেত্রকোনার মদনে মো. আব্দুল হান্নান তালুকদার।

মানিকগঞ্জ সদরে মো. রমজান আলী, ঢাকার ধামরাইয়ে গোলাম কবির, সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে বিশ্বজিৎ রায়, মৌলভীবাজারের বড়লেখায় আবুল ইমাম মো. কামরান চৌধুরী, হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে মো. মাসুদউজ্জামান মাসুক ও চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বদিউল আলম।

 নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৮ ডিসেম্বর ইভিএম পদ্ধতিতে ২৫ পৌরসভার ভোট গ্রহণ ২৮ অনুষ্ঠিত হবে।

খুলনায় মাস্ক পরিধান না করায় ৮১০০ টাকা জরিমানা ও আটক ২৪ জন

খুলনায় মাস্ক পরিধান না করায় ৮১০০ টাকা জরিমানা ও আটক ২৪ জন

তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা নগর প্রতিনিধিঃ
করোনাভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাব্য দ্বিতীয় ওয়েভ মোকাবেলার প্রস্তুতি হিসেবে গতকাল ২৮ নভেম্বর, সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেন পিএএ মহোদয়ের নির্দেশে নগরীর সোনাডাঙ্গা বাসস্টপ, বয়রা বাজার,খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এর সামনে এবং নিরালা আবাসিক এলাকায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালিত হয়। মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোঃ রাকিবুল ইসলাম এবং জনাব শারমিন জাহান লুনা। এছাড়া উপজেলাসমূহে উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি)-গণ নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। 

মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে মাস্ক সাথে না থাকায় এবং যথাযথভাবে মাস্ক পরিধান না করায় ২৪টি মামলায় ২৪ (চব্বিশ) জনকে মোট ৮,১০০/- (আট হাজার একশত) টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। 'সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮' এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক এসব জরিমানা করা হয়। 

সম্প্রতি করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় গত ০৮ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখের জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভার সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে ০৯ নভেম্বর, ২০২০ তারিখ থেকে জেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থা গ্রহণ করে। 

মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন এপিবিএন এবং উপজেলাসমূহে স্ব-স্ব থানা পুলিশের সদস্যগণ। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে জেলা প্রশাসনের এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

মোংলায় তৃতীয় দিনের মত অবস্থান কর্মসূচী ও কর্মবিরতী চলছে

মোংলায় তৃতীয় দিনের মত অবস্থান কর্মসূচী ও কর্মবিরতী চলছে



মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ নিয়োগ বিধি সংশোধন, বেতন আপগ্রেড়েশন ও টেকনিক্যাল (স্কেল) পদ মযার্দার দাবীতে মোংলায় রবিবারও তৃতীয় দিনের মত অবস্থান কর্মসূচী ও কর্মবিরতী পালন করছেন উপজেলার স্বাস্থ্য সহকারী, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক এবং স্বাস্থ্য পরিদর্শকেরা। গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে এ কর্মসূচী পালন করে আসছেন। দাবী বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অবস্থান ও কর্মবিরতির পাশাপাশি ‘হামরুবেলা ক্যাম্পেইনসহ ইপিআইথ কার্যক্রম বর্জন করেছেন আন্দোলনকারীরা। এর ফলে মোংলাসহ দেশব্যাপী শিশুদের টিকা দান ও মাঠ পযার্য়ের স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম সম্পূর্ণভাবে বন্ধ রয়েছে। ‘বাংলাদেশ হেলথ এসিসট্যান্ট এসোসিয়েশন ও দাবী বাস্তবায়ন সমন্বয় পরিষদথর মোংলা শাখার নেতৃত্বে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের স্বাস্থ্য সহকারী, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক এবং স্বাস্থ্য পরিদর্শকেরা তাদের সকল কার্যক্রম বন্ধ রেখে দাবী আদায়ের জন্য আন্দোলন অব্যাহত রেখেছেন। 

উপজেলার স্বাস্থ্য সহকারী শিপলু মৌলিক বলেন, আমাদের মুল দাবী বেতন বৈষম্য দূর করা এবং টেকনিক্যাল মযার্দা নিশ্চিত করা। আমরা টেকনিক্যাল কাজ করি, কিন্তু আমাদের টেকনিক্যাল মযার্দা নেই, নেই ট্রেনিংও। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, আমাদের দেশে মানুষের কোন মূল্য নেই। কারণ কৃষি, মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ বিভাগের মাঠ কমর্ীদের ট্রেনিং দেয়া হয়, অথচ আমরা শিশুদের নিয়ে সাধারণ মানুষদের নিয়ে কাজ করি অথচ আমাদের ট্রেনিংয়ের কোন ব্যবস্থাই নেই। 

উপজেলার অপর স্বাস্থ্য সহকারী আজমিরা খাতুন বলেন, দাবী বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন  চালিয়ে যাচ্ছি এবং চালিয়ে যাবে। যতক্ষণ না পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী আমাদের দাবী বাস্তবায়ন না করবেন ততদিন পর্যন্ত আমরা মাঠে বসেই থাকবো।  

১৯৯৮ সালে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত এ দাবী পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তারা মাঠ থেকে উঠবেন না এবং কর্মক্ষেত্রেও যোগ দিবেন না। এ দাবী বাস্তবায়নে দ্রুত প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আর্কষণ ও হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা। 


নড়াইলের পল্লিতে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকায় দুই যুবতী ও এক যুবক আটক

নড়াইলের পল্লিতে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকায় দুই যুবতী ও এক যুবক আটক

মো: আজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃ নড়াইলের লোহাগড়া পৌরসভার  সরকারপাড়া নামক একটি ফ্লাট বাসায় অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকায় ২৯/ নভেম্বর ২০২০ তারিখ :রবিবার দুপুর ১ টা ৩০ মিনিটের দিকে মো: মশিয়ার মোল্ল্যা (৩৫)পিতা: মকলেছ মোল্ল্যা, সাং ধোপাদাহ, ও রুনা খানম (৩২)স্বামী শহিদ,সাং কুন্দসি, এবং লিপি (ওরফে) সুমী (২৬) স্বামী হাকিম, সাং রামকান্তপুর সর্ব থানা লোহাগড়া, জেলা নড়াইল, নামের দুই নারী ও এক যুবক কে অাটক করেছেন লোহাগড়া থানা পুলিশ।
পুলিশ,ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, লোহাগড়ার সরকাপাড়ার মো: এনায়েত হোসেন ভুঁইয়ার বাড়িতে একমাস অাগে বাসা ভাড়া করে রুনা নামের এক নারী, এরপরে ওই বাসায় বহিরা গত মেয়েদের এনে প্রতিদিন করানো হয় দেহ,ব্যবসা।এ বিষয়ে বাড়ির মালিক মো: এনায়েত হোসেন ভুঁইয়ার কাছে ওই রুনার পরিচয় পত্র চাইলে তিনি বলেন এক মাস অাগে বাসা ভাড়া দিয়েছিলাম বাসা নেওয়ার সময় রুনা অামাকে কোনো কাগজ পত্র দেয় নাই। 
লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ অাশিকুর রহমান বলেন, অাসামিদের নামে মামলা রজু করে অাদালতে প্রেরন করা হবে।

সজিব আজও ফিরে এলোনা নানির কাছে

 সজিব আজও ফিরে এলোনা নানির কাছে

  



রাজশাহী ব্যুরো 
আজ থেকে প্রায় ৪ বছর আগের কথা ,সাজানো গোছানো ভাবে কথা বলতে পারেনা সজিব, বয়স তার অনুমানিক ১০থেকে ১১ বছর । গ্রামের ছেলে মিয়েদের সাথে মিলে মিশে খেলা ধুলা করে সজিব প্রতদিন। নিজের ঠিকানা ভালো বলতে পারেনা সে, তার নাম জিজ্ঞাসা করলে বলে আমার নাম তদিব,মায়ের নাম হানিফা,বাড়ি তুরিপুর।
প্রতি দিনের মত পাড়ার সকল ছেলে মিয়ে খেলা ধুলা শেষে বাড়ি ফিরেছে সন্ধা ঘনিয়ে এলেও সজিব আসেনা ওর নানি সুফিয়া বিবি ডাকে সজিবরে..তারা তারি বাড়িতে আয় রাত হল, রাত যায় দিন যায় সজিব আর ফিরে এলোনা।
প্রায় দুই বছর পর খোঁজ মিলে ভারতের লেখক সুরুজ দাসের ফেচবুকে সজিবের ছবি, সজিব নাকি মানব পাচার কারীর মাধ্যমে ইন্ডিয়া পালিয়ে গেছে সেখান থেকে ইন্ডিয়ান পুলিশ ধরে নিয়ে মানসিক শিশু সদনে রেখেছে। খোঁজ পেয়ে এলাকার মানুষ মানবতার খাতিরে  বিভিন্ন ধরনের পরিচয় পত্র ও ছবি পাঠিয়ে দিয়েছে ইন্ডিয়াতে। কিন্তু আজও ফিরলো না ভারতে পাচার হওয়া সজিব ফিরলোনা তার দুখিনি নানির কাছে। 
এলাকার মানুষের ও ছেলে মিয়েদের সকলের  একটায় দাবি সজিব ফিরে আসুক সকলে কাছে এটাই সকলে কামনা।

দিনাজপুরে অনুষ্টিত হলো বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের রংপুর বিভাগীয় সম্মেলন

দিনাজপুরে অনুষ্টিত হলো বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের রংপুর বিভাগীয় সম্মেলন





মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি : খাস জমির অধিকার ভুমিহীন জনতার ও ভুমিদ:স্যুদের কাছ থেকে খাস জমি উদ্ধার করো ভুমিহীনদের মাঝে বন্ঠনসহ বিভিন্ন শ্লোগান নিয়ে দিনাজপুরে অনুষ্টিত হলো বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের রংপুর বিভাগীয় সম্মেলন।
দিনাজপুর শহরের আনন্দসাগরস্থ গোষ্ঠ মন্দির প্্রাঙ্গনে বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের রংপুর বিভাগীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি মো: বেলায়েত হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের প্রধান উপদেষ্টা মো: ইকবাল আমীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভুমিহীন আন্দোলনের কেন্দ্রীয় আহবায়ক মো: সাইদুর রহমান,সদস্য সচিব শেখ নাসির উদ্দিীন,হানিফ বাংলাদেশী,বগুড়া জেলা সভাপতি মোছা: লিপি বেগম,দিনাজপুর প্রতিনিধি মো: শাহাদত হোসেন মোল্লা,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি মোছা: মল্লিকা বেগম, কাহারোল উপজেলা সভাপতি মো; স্বপন ভুঁইয়া। এসময় অন্যান্যের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় নেতা জাহাঙ্গীর আলম,মো: জনি,হাজেরা বেগম,আয়েশা খাতুন ও আদিবাসী নেত্রী শ্রীজল টুডু।সম্মেলনে বক্তারা বলেন,১৯৭৩ সালের ৩ জানুয়ারী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমান তার জনসভায় ভুমিহীনদের জন্য যে কর্মসুচীর ঘোষনা দিয়েছেন তার পুর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন করতে হবে। ভুমিহীনদের বাসস্থানের জন্য তাদের নামে খাস জমির বন্দোবস্ত দিতে হবে। রেললাইন ও রাস্তার দু'পাশের যে সকল ভুমিহীন অসহায় লোকজন বসবাস করে তাদেরকেই পূর্ণবাসন করতে হবে। ভুমিদস্যূদের কাছ থেকে খাস ঝমি জমি উদ্ধার করে ভুমিহীনদের মাঝে বন্ঠন ও জেলা-উপজেলার খাস জমি বন্ঠন কমিটিতে ভুমিহীন নেতৃবৃন্দকে সম্পৃক্ত করতে হবে। দেশের মধ্যে রংপুর বিভাগ অর্থনৈতিক ভাবে অন্যতম পিছিয়ে পড়া অঞ্চল। এ অঞ্চলের মানুষকে এগিয়ে নিতে সরকারকে বিশেষ পদক্ষেপ নিতে হবে। তারা বলেন,অবহেলিত ভুমিহীন মানুসদের রক্ষায় সরকারকে কৃষক শ্রমিক মেহনতি মানুষের জীবনমান উন্নয়নে বিশেষ বরাদ্ধ প্রদান করতে হবে।

বেনাপোল বর্ডার দিয়ে হস্তান্তর করেছে ভারতে পাচার হওয়া ৪ বাংলাদেশি যুবতীকে

 বেনাপোল বর্ডার দিয়ে হস্তান্তর করেছে ভারতে পাচার হওয়া ৪ বাংলাদেশি যুবতীকে

 




আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।



রবিবার (২৯ নভেম্বর ) সকাল ১০ টার সময় দেড় বছর পর যশোরের বেনাপোল বর্ডার দিয়ে দেশে ফিরল ৪ বাংলাদেশি যুবতী ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদেরকে হস্তান্তর করেন ।


ফেরত আসারা হলেন, আসমা আক্তার (২২), সোনিয়া আক্তার (২০), লিজা শেখ (২৩) ও জেসমিন আক্তার (২৪) এদের বাড়ি দেশের নড়াইল, ফরিদপুর, নারায়ণগঞ্জ ও ঢাকা জেলায়।  


তাদের কাজ থেকে জানাযায়, অভাবের কারণে দালালের খপ্পরে পড়ে দেড় বছর আগে অবৈধ পথে ভারতে গিয়েছিলেন। ভারতের গুয়াই বাসা বাড়িতে কাজ করার সময়, সে দেশের পুলিশের হাতে আটক হন তারা। পরে সেখান থেকে এ আর জেড নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। পরে দু'দেশে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনে তাদের দেশে ফিরিয়ের আনা হয়।


বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব ৪ জন বাংলাদেশি যুবতীকে ফেরত আসার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তাদের বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছি। সেখান থেকে যশোর জাস্টিজ এন্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের গ্রহন  করবেন ।

‘শব্দজাল’ ও ‘রাতের স্বপ্ন’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

‘শব্দজাল’ ও ‘রাতের স্বপ্ন’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন
প্রধান অতিথি জনাব গিলবার্ট নির্মল বিশ্বাসের হাতে বই তুলে দিচ্ছেন স্বপন কুমার সরকার এবং মোঃ সোহরাব হোসেন খাঁন - কপোতাক্ষ নিউজ

নিউজ ডেস্কঃ যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলাধীন গঙ্গানন্দপুর ডিগ্রী কলেজের ইংরেজি বিষয়ের প্রভাষক স্বপন কুমার সরকারের কবিতাগ্রন্থ ‘শব্দজাল’এবং বাংলা বিষয়ের সহকারী অধ্যাপক মোঃ সোহরাব হোসেন খাঁনের কবিতাগ্রন্থ ‘রাতের স্বপ্ন’- এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জনাব গিলবার্ট নির্মল বিশ্বাস বক্তব্য রাখছেন - কপোতাক্ষ নিউজ

গতকাল শনিবার সকালে গঙ্গানন্দপুর ডিগ্রী কলেজ অডিটোরিয়ামে বই দুটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গঙ্গানন্দপুর ডিগ্রী কলেজের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি জনাব গিলবার্ট নির্মল বিশ্বাস। 

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন গঙ্গানন্দপুর ডিগ্রী কলেজের উপাধ্যক্ষ শাহজাহান সিরাজ ও অধ্যক্ষ বাবু জয়ন্ত কুমার বিশ্বাস

অনুষ্ঠানে গঙ্গানন্দপুর ডিগ্রী কলেজের ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জামাল উদ্দিন আহমেদ, অধ্যক্ষ বাবু জয়ন্ত কুমার বিশ্বাস,  গঙ্গানন্দপুর ডিগ্রী কলেজের উপাধ্যাক্ষ শাহজাহান সিরাজ, প্রমুখ বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন  ভূগোল বিভাগের প্রভাষক জনাব লিয়াকত আলী। এছাড়া গঙ্গানন্দপুর ডিগ্রী কলেজের সকল শিক্ষক, কর্মচারীবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

স্বপন কুমার সরকার ও মোঃ সোহরাব হোসেন খাঁনের হাতে সার্টিফিকেট তুলে দিচ্ছেন সাগরিকা প্রকাশনীর চাষী এস. কে খান ও মোঃ জহির উদ্দীন

অনুষ্ঠান শেষে স্বপন কুমার সরকার ও মোঃ সোহরাব হোসেন খাঁন এর হাতে আইএসবিএন সার্টিফিকেট তুলে দেন বই দুটির প্রকাশক সাগরিকা প্রকাশনীর প্রকাশক (ভারপ্রাপ্ত) চাষী এস. কে খান (মোঃ সবুজ হোসেন) এবং সাগরিকা প্রকাশনীর তত্ত্বাবধায়ক মোঃ জহির উদ্দীন।

বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে শালিখায় কর্মবিরতি

 বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে শালিখায় কর্মবিরতি



মাগুরা প্রতিনিধি:সারাদেশে বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন বাংলাদেশ হেলথ অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাসোসিয়েশন। আর এই কর্মবিরতিকে সফল করতে মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রান্তরে অবস্থান করছেন স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্যসহকর্মীরা। এ বিষয়ে বাংলাদেশ হেলথ এসোসিয়েশন শালিখা উপজেলা শাখার সভাপতি, জনাব মোঃনজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক,তারক বিশ্বাস এর সাথে কথা বললে তারা জানান আমাদের দাবি আদায় না হলে কর্মবিরতি চলবে।

তারা আরো জানান বেতন স্কেল ও টেকনিক্যাল পদোন্নতি না হলে আমাদের কর্মবিরতি অনির্দিষ্ট কালের জন্য চলতে থাকবে।১৯৯৮ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা, ২০১৮ সালে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ঘোষণা, এবং ২০শে জানুয়ারি ২০২০ তারিখে মাননীয়, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর লিখিত  প্রতিশ্রুতি- স্বাস্থ্য পরিদর্শক১২।

এবং স্বাস্থ্য সহকারীদের ১৩ তম গ্রেড প্রদান করে, নিয়োগবিধি সংশোধন।ও দাবি আদায় করার লক্ষ্যে আমাদের এই কর্মবিরতির ডাক দেয়া হয়।।

পূনর্মিলনী ফুটবল টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন

পূনর্মিলনী ফুটবল টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ  বগুড়া বৃন্দাবনপাড়া খেলার মাঠে বিজয় ৭১ যুব সংঘ উদ্যোগে ৬ষ্ঠ তম পূনর্মিলনী ফুটবল টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে ফুটবল খেলার উদ্বোধন করেন ফাঁপোড় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মমিনুর ইসলাম রকি।

বিশেষ অতিথি রাইজিং ক্লাবের উপদেষ্ঠা ও সমাজসেবক মোতায়াল্লী নওশাদুর রহমান নিশান মন্ডল, রাইজিং ক্লাবের সাবেক সভাপতি মাসুম, সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম জেঠো, সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম রাজু, দপ্তর সম্পাদক সাজ্জাদ আলম পারভেজ, ১,২ ও ৩ নংওয়ার্ডের কাউন্সিল প্রার্থী আইভি আক্তার নুপুর, পাপ্পু,নিশাদ,বাবু,রিদয় প্রমুখ।

সিভিল সার্জনের উপস্থিত খবর পেয়ে ক্লিনিক মালিক পলাতক-৩

সিভিল সার্জনের উপস্থিত খবর পেয়ে ক্লিনিক মালিক পলাতক-৩

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।। যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া বাজারে সিভিল সার্জনের পরিদর্শনের খবর পেয়ে ক্লিনিক তালাবদ্ধ করে পালিয়ে যায় তিন ক্লিনিক মালিক। এসময় ৫ টি ক্লিনিকে তালা ঝুলিয়ে দেন সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহিন।গতকাল (২৮ শে নভেম্বর )শনিবার সকাল ১০. টার সময় যশোরের সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিন, ঝিকরগাছার বাঁকড়া বাজারে  পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনের খবর পেয়ে  বাঁকড়া পারবাজারের কপোতাক্ষ সার্জিক্যাল ক্লিনিকের মালিক আব্দুর রশিদ, পারপাজার সার্জিক্যাল ক্লিনিকের মালিক লিলি খাতুন ও স্টার ক্লিনিকের মালিক আবুল হাসেম, ক্লিনিক বন্ধ করে পালিয়ে যায়। সিভিল সার্জন এসে তাদের প্রতিষ্ঠান বন্ধ দেখতে পান।

কয়েক মাস আগে সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিন বাঁকড়ায় পরিদর্শন করে ক্লিনিক চালানোর বৈধতা না থাকায় তাদের ক্লিনিক বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন। কিন্তু তারা সিভিল সার্জনের নির্দেশ অমান্য করে, ক্লিনিকের জমজমাট ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিলেন। 

শনিবারে সিভিল সার্জন তাদের ক্লিনিকে গিয়ে প্রতিষ্ঠান খোলা পাননি। সিভিল সার্জন আসার আগেই তারা ক্লিনিক বন্ধ করে পালিয়ে যান।

এদিকে সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিন বাঁকড়ায় পরিদর্শনে গিয়ে বাঁকড়া সার্জিক্যাল ক্লিনিক, স্টার ক্লিনিক, পারবাজার কপোতাক্ষ সার্জিক্যাল ক্লিনিক, পারবাজার সার্জিক্যাল ক্লিনিক, একতা মেডিকেল সেন্টারে তালা ঝুলিয়ে দেন এবং সায়রা সার্জিক্যাল ক্লিনিক ও বিকে ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে পুরোপুরি আইন মানার হুঁশিয়ারি করেন। 

তালাবদ্ধ মালিকদের ক্লিনিক চালানোর বৈধতা অর্জন করলে তাদের ক্লিনিক খুলে দেবেন বলে জানান। এ সময় সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিনের সাথে ছিলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. হাবিবুর রহমান।এ সময় সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিন সাংবাদিকদের জানান, ক্লিনিক বিষয়ে কোনো অনিয়ম মেনে নেয়া হবে না। কাগজপত্র ও নিয়ম মানলে বৈধতা দেয়া হবে।

সন্দ্বীপ প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত ৪২ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ - ২০২০

সন্দ্বীপ প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত ৪২ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ - ২০২০

জিহাদুল ইসলাম,  স্টাপ রির্পোটারঃগত ২৮ নভেম্বর ২০২০, সামাজিক দূরত্ব মেনে সন্দ্বীপ উপজেলা প্রাঙ্গণের কবি আব্দুল হাকিম অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় ৪২ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ-২০২০

উক্ত অনুষ্ঠানটির পৃষ্ঠপোষকতায় ছিলেন  বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং এবং তত্ত্বাবধানে ছিলেন জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর। উক্ত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম, ৩ সন্দ্বীপ আসনের মাননীয় এমপি আলহাজ্ব মাহফুজুর রহমান মিতা, বিশেষ অতিথি ছিলেন সন্দ্বীপ উপজেলার মাননীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাষ্টার শাহাজান বিএ, এবং অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্বে ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিদর্শী সম্বৌধি চাকমা। 

সকাল ১০ টায় অনুষ্ঠানটি শুরু হয়। জুনিয়র গ্রুপ বা মাধ্যমিকের ১৬ টি বিদ্যালয় মোট ৩৩ টি প্রজেক্ট এবং সিনিয়র গ্রুপ বা কলেজ পর্যায়ের সর্বমোট ৮ টি প্রজেক্ট নিয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের অতিথিবৃন্দ ও বিচারকবৃন্দরা প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের প্রজেক্ট পরিদর্শন করেন। প্রজেক্ট পরিদর্শন শেষে শিক্ষার্থীদের উপস্থিত বক্তব্যের পর্ব শুরু হয়। অতিথিদের বক্তব্যর পর প্রজেক্ট এবং উপস্থিত বক্তব্যের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ফলাফল ঘোষণার পরে বিজয়ী প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষার্থীদের পুরুষ্কার বিতরণ করেন।  সর্বশেষে সভাপতি বক্তব্য এবং অনুষ্ঠানটির সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

পুলিশের অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত আসামি সিলেট থেকে গ্রেপ্তার

পুলিশের অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত আসামি সিলেট থেকে গ্রেপ্তার

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে সিলেট শহর থেকে  ফয়জুল ইসলাম নামে এক পলাতক সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে।

জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুলাউড়া থানার নবাগত ওসি বিনয় ভূষণ রায় এর নেতৃত্বে এএসআই তপন দেব তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সিলেট শহরে সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে গ্রেপ্তারের অভিযান পরিচালনা করেন।অভিযানকালে (২৮ নভেম্বর) শনিবার সন্ধ্যায় সিলেট শহরের দরগাহ গেইট এলাকা থেকে ফয়জুল ইসলাম নামে এক বছরের বিনাশ্রম সাজাপ্রাপ্ত ও দশ লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত আসামিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।গ্রেপ্তারকৃত আসামি ফয়জুল ইসলাম কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের উত্তরভাগ নিবাসী মৃত মদরিস আলী মদইয়ের ছেলে।

ওসি বিনয় ভূষণ রায় জানান, গ্রেপ্তারকৃত ফয়জুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে দায়েরকৃত সিআর দায়রা মামলা নং ২৪৩৮/১৩ এবং ২০১০/১৩ এর দুটি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি।গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে শনিবার রাতে সিলেট থেকে কুলাউড়া থানায় নিয়ে আসা হয়েছে ও রবিবার তাকে মৌলভীবাজার কোর্টে সোপর্দ করা হবে বলে ওসি জানান।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের সাবেক উপদেষ্টা, মোফাজ্জল করিম গুরুতর অসুস্থ

 বিএনপি চেয়ারপার্সনের সাবেক উপদেষ্টা, মোফাজ্জল করিম গুরুতর অসুস্থ

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃবিএনপি চেয়ারপার্সনের সাবেক উপদেষ্টা, সাবেক সচিব, সাবেক রাষ্ট্রদূত, বিশিষ্ট লেখক ও কবি ,প্রিয় মুখ ,সমাজের আলোকিত গুনিজন, 

জনাব এ এইচ এম মোফাজ্জল করিমকে ২৭ নভেম্বর শুক্রবার ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালে ভর্তির পর তাঁকে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে।

জানা যায়, কুলাউড়া উপজেলাধীন ভাটেরা ইউনিয়নের বেরকুড়ী নিবাসী ঢাকায় বসবাসরত এ,এইচ,এম মোফাজ্জল করিম গত কিছুদিন যাবৎ তাঁর নিজ বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়ায় শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাঁকে শুক্রবার ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওনার  আশু রোগ মুক্তির জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে শুভাকাঙ্ক্ষীসহ সকলের কাছে দোয়া কামনা করা হয়েছে।