রাজাপুরে বইছে ইউপি নির্বাচনী হাওয়া

রাজাপুরে বইছে ইউপি নির্বাচনী হাওয়া

রাজাপুর উপজেলা প্রতিনিধিঃ-মো ইসমাঈল হোসেন:সময় ঘনিয়ে আসছে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের। আগামী ১১ এপ্রিল প্রথম দফায় ৩২৩টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ঝালকাঠির রাজাপুরে ও নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আর তফসিল ঘোষণা করা হবে মার্চের তিন তারিখ। 

রাজাপুরে আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বইছে আগাম নির্বাচনী হাওয়া।চায়ের দোকানে দোকানে বইছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে বিশ্লেষণ। নড়েচড়ে উঠেছে চেয়ারম্যান ও সদস্য পদের সম্ভাব্য প্রার্থীরা।

অনেকেই আগাম প্রচার প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন। বাড়ি বাড়ি কুশল বিনিময়ও করছেন অনেকেই।প্রচার-প্রচারণা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সমানতালে চলছে।রাজাপুরে  ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ৬ টি। এখনও নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না হলেও ইতিমধ্যে নির্বাচন ঘিরে ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে প্রার্থীদের ব্যাপক দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়েছে।

নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীদের কেউ কেউ এলাকার ভোটারদের মাঝে দিচ্ছেন আগাম প্রতিশ্রুতি। এছাড়াও নানা রকম কৌশল অবলম্বন করে ভোটের মাঠে নিজেদের অনুকূলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন অনেকেই। দলীয় সমর্থন পেতে একই আসনে একাধিক প্রার্থীর পক্ষ থেকে চলছে নানারকম তদবির, রাজনৈতিক কার্যালয়গুলোও সরগরম হয়ে উঠেছে। দলীয় সমর্থন পাওয়ার জন্য তৎপর হয়ে উঠেছে ওইসব ইউনিয়নের সম্ভাব্য প্রার্থীরা।

আশিক লিটনের শুভ জন্মদিন শুভেচ্ছা জানিয়েছে স্বপ্নের আলো ফাউন্ডেশন'র সকল সদস্য

আশিক লিটনের শুভ জন্মদিন শুভেচ্ছা জানিয়েছে স্বপ্নের আলো ফাউন্ডেশন'র সকল সদস্য

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার  
ঝালকাঠির সেচ্ছাসেবী আশিক লিটনের জন্মদিন আজ পহেলা মার্চ। তিনি এই দিনে এক হিন্দু  পরিবারের জন্মগ্রহণ করেন। সেচ্ছাসেবী আশিক লিটন জনপ্রিয় সেচ্ছাসেবী সংগঠন রক্ত কণিকা ফাউন্ডেশ (RKF) এর প্রতিষ্ঠাতা, ও সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

ছাত্রজীবন থেকেই তিনি সেচ্ছাসেবী পেশায় নিয়োজিত, তিনি সেচ্ছাসেবী কাজ করে বাংলাদেশের মানুষের মনজয় করে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। তার পরিচিতির জগৎ স্বাভাবিকভাবেই বিস্তৃত। তার ঘনিষ্ঠ যোগাযোগের বৃত্তে বিখ্যাত ব্যক্তিগণ। সেখানে দল, মত, গোষ্ঠীর কোনো নেই বাছবিচার। তবে ব্যক্তিগত সুসম্পর্ক কখনো তার সেচ্ছাসেবী সত্তাকে আচ্ছন্ন করে না। এই আপসহীনতাই তাকে এগিয়ে এনেছে। আপনার সততা, প্রজ্ঞা,মেধা,বিচক্ষণতা,বুদ্ধিমত্তা দিয়ে সামনে আরো এগিয়ে যান। সুন্দর ও প্রাণবন্ত হোক আপনার আগামীর প্রতিটি সূর্যোদয়,চাঁদের আলোই উদ্ভাসিত হোক আপনার জীবনের প্রত্যেকটি মুহূর্ত। জন্মদিনের অনেক অনেক প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই!

তাঁর জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, স্বপ্নের আলো ফাউন্ডেশন (SAF) এর সকল সদস্য। তাঁর জন্মদিন উপলক্ষে সকালের কাছে আর্শিবাদ কামনা করেছেন।

ময়মনসিংহে জাতীয় বীমা দিবস পালিত

ময়মনসিংহে জাতীয় বীমা দিবস পালিত

আশিকুজ্জামান মিজান ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, বীমা হোক সবার" এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে এগিয়ে যাচ্ছে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিঃ ময়মনসিংহ শাখা। ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিঃ এর বিভাগীয় ইনচার্জ মোঃ আশরাফুজ্জামান আজাদ বলেন ময়মনসিংহে ২০২০/২০২১ টানা ১বছরে আমাদের কোম্পানিতে বীমা সংখ্যা ও জমাকৃত টাকা শীর্ষে রয়েছে। 

বীমা দিবসকে উপলক্ষ করে আজ ১লা মার্চ সোমবার ময়মনসিংহে বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে
জাতীয় বীমা দিবস উদযাপন করা হয়। সকাল ১১ ঘটিকায় ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসনের আয়োজনে  ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী শিল্পকলা একাডেমীতে পালন করা হয় জাতীয় বীমা দিবস। বীমা দিবসকে ঘিরে ময়মনসিংহে টানা ৪ ঘন্টা আলোচনা সভা ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরুষ্কার প্রদান করা হয় বলে জানা যায়।

জানা গেছে, ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক ডিসি মোঃ মিজানুর রহমান এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জনাব কামরুল হাসান এনডিসি, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, এডিসি জাহাঙ্গীর আলম, জীবন বীমা কর্পোরেশনের ডেপুটি জেনারেল ম্যানাজার, মোঃ এ.কে.এম. এ আওয়াল, সাধারণ বীমা কর্পোরেশনের জোনাল ইনচার্জ, মোঃ নজরুল ইসলাম, পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কম্পোনীর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার, মোঃ আবুল কাশেম মোল্লা, ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিঃ এর বিভাগীয় ইনচার্জ মোঃ আশরাফুজ্জামান আজাদ প্রমুখ।

এ ছাড়াও স্থানীয় রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, সরকারি কর্মকর্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, বিভিন্ন বীমা কোম্পানীর কর্মকর্তা-কর্মী, বীমা গ্রহিতাগণ এতে অংশগ্রহন করেন।

সেই দিনটির জন্য মোঃ সাইফুল ইসলাম

সেই দিনটির জন্য মোঃ সাইফুল ইসলাম

শান্তির রবি স্তম্ভিত হয়েছে সেদিন;
যেদিন ধর্মে ঢুকেছে স্বার্থের নিদান
হায়! শান্তির ধর্মে আজ অশান্তি!
কোথায় ঘুমিয়ে আছে আল-কোরআনের বিধান?

অন্তর চক্ষুতে পরেছে ছানি!
প্রত্নের ইতিহাস মোরা কি জানি?
পরিপূর্ণ জীবন বিধানকে করে অবহেলা
ধ্বংশের মুখে দিয়েছি দৌড়, জমিয়ে অন্যায়ের খেলা ।

হে মুসলিম উম্মাহ-
মনে কি পড়ে, বিশ্ব নবীর যুগের কথা?
যেথায় ছিল না অশান্তি, রাহাজানি,  ধর্মের অপূর্ণতা।
আইয়ামে জাহিলিয়া যুগ দেখেছিল মুক্তির পথ
ধ্বজা উড়েছে বিশ্বজয়ের ভুলে সব ভিন্ন মত।

তবে কেন আজি ধর্ম দিয়ে দলাদলি? 
ভিন্ন দলের ভিন্ন চালচলন,  মনগড়া ফতোয়াবাজি!
পুঁজি যাদের ধর্ম ব্যবসা, সাবধান হও অচির
নিপাতের দিন ঘনিয়েছে নিকটে
ফিরবে আবার শান্তি ডিঙিয়ে স্বার্থবাদের প্রাচীর  ।

মোঃ জলিল উদ্দিন হাওলাদার (জলিল শাহ)কে ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী হিসেবে দেখতে চায়

মোঃ জলিল উদ্দিন হাওলাদার  (জলিল শাহ)কে ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী হিসেবে দেখতে চায়

রাজাপুর উপজেলা প্রতিনিধিঃ-ইসমাইল হোসেন ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার ৩নং রাজাপুর  ইউনিয়নের আসন্ন (ইউপি) নির্বাচনে ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী হিসেবে মোঃ জলিল উদ্দিন হাওলাদার (জলিল শাহ) কে দেখতে চায় এলাকার জনগণ। বারবাকপুর ও রোলা এলাকার ৮নং ওয়ার্ডে নির্বাচনী আমেজ জমে উঠেছে। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে পাড়া মহল্লার সব যায়গায় নির্বাচনী আমেজ দেখা যায়। এবারেরে নির্বাচন অনেকেই ব্যাতির্কম মনে করেন। বএলাকায় দলমত নির্বিশেষে ৮নং ওয়ার্ডের সাধারণ ভোটারদের মুখে এখন পর্যন্ত সমাজ সেবক মোঃ জলিল উদ্দিন হাওলাদার(জলিল শাহ)  নাম উল্লেখযোগ্য ভাবে সকলের মুখে শোনা যায়। এবারের নির্বাচনে ৮নং ওয়ার্ডে বারবাকপুর ও রোলা এলাকায় একাধিক প্রার্থী হবার সম্ভাবনা আছে। তার মধ্যে একজন সৎ যোগ্য মোঃ জলিল উদ্দিন হাওলাদার (জলিল শাহ) কে ৮নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য নির্বাচনে প্রার্থী হিসাবে দেখতে চায় এলাকার জনগণ। গরীব দুঃখী মানুষের বন্ধু,স্থানীয় সমাজ সেবক সৎ যোগ্য ও ত্যাগী এই নেতা কে বারবাকপুর ও রোলা  এলাকার ৮নং ওয়ার্ডের ভোটার সহ এলাকাবাসী জানান এই ৮নং ওয়ার্ডে নির্বাচনে ইউপি সদস্য হিসাবে মোঃ জলিল উদ্দিন হাওলাদার (জলিল শাহ) নির্বাচিত হলে রাস্তাঘাটের উন্নয়ন, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি ও মাদক মুক্ত সমাজ গড়ে তুলতে পারবে। এলাকার জনগণ আরও বলেন একজন সৎ, যোগ্য, ত্যাগী, গ্রহণযোগ্য ও দুর্নীতিমুক্ত ব্যক্তিকে ইউপি সদস্য প্রার্থী হিসাবে দেখতে চাই। তাহলেই ৮নং ওয়ার্ডে উন্নয়ন বাস্তবায়িত হবে। এমন আশা প্রকাশ করছেন এলাকার সচেতন জনসাধারণ। তারা বলেন এক কথায় রাজাপুর উপজেলার ঐতিয্যবাহী পরিবারের সন্তান তিনি। তাই আসন্ন ৮নং ওয়ার্ড নির্বাচনে আমাদের প্রাণ প্রিয় নেতা মোঃ জলিল  উদ্দিন হাওলাদার (জলিল শাহ) কে ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী হিসেবে দেখতে চাই ৮নং ওয়ার্ডের সর্বস্তরের জনগণ। মো জলিল উদ্দিন হাওলাদার (জলিল শাহ) বলেন আমাকে যদি এলাকাবাসী আসন্ন নির্বাচনে ইউপি সদস্য হিসাবে নির্বাচিত করে তাহলে এলাকার যে সকল অসম্পূর্ণ কাজ বাকি আছে, সেই সকল কাজ আমি সম্পূর্ণ করবো ইনশাআল্লাহ, এবং এই ৮নং ওয়ার্ডের কর্মসংস্থান বৃদ্ধি ও মাদক মুক্ত সমাজ গড়ে তুলবো। আমি চাই আমার ৮নং ওয়ার্ড মানুষের খেদমত করতে বাকিটা আল্লাহ ভারসা

পুলিশের বাঁধায় লালমনিরহাটে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল পন্ড হয়েছে

পুলিশের বাঁধায় লালমনিরহাটে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল  পন্ড হয়েছে

রশিদুল ইসলাম রিপন লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ আজ সোমবার (১ মার্চ ২০২১) দুপুর তিনটায় লালমনিরহাট জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে ছাত্রদলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা একত্রিত হয়।

তারা রাস্তায় ব্যানার নিয়ে দাঁড়িয়ে বিক্ষোভের পাশাপাশি একটি মিছিল বের করলে সেই মিছিলটিকে আর এগুতে দেয়নি পুলিশ। পরে ফিরে এসে কার্যালয়ের সামনে আবারো বিক্ষোভ প্রদর্শন করে ছাত্রদলের  সব নেতাকর্মীরা।
বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ গ্রহণ করেন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নাজমুল হুদা লিমন, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম আনন্দ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ লিংকন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহফুজুর রহমান মিন্টু, সিনিয়র সহ-সভাপতি মিঠুন সরকার মিঠু সহ দলের বিভিন্ন ইউনিটের অন্যান্য নেতাকর্মীরা।

বিক্ষোভ সমাবেশে সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যে জাহাঙ্গীর আলম আনন্দ বর্তমান সরকারের নানা সমালোচনা করেন।

যশোরের শার্শার বাগআঁচড়ায় ৩০বোতল ফেন্সিডিলসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক

যশোরের শার্শার বাগআঁচড়ায় ৩০বোতল ফেন্সিডিলসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টারঃ যশোরের শার্শা উপজেলার বসতপুর পাঁকা রাস্তার  উপর থেকে  পুলিশি  অভিযানে ৩০ বোতল ফেন্সিডিল সহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ। 

(১লা মার্চ) সোমবার সকালে বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র এলাকাধী শার্শা থানার বসতপুর পাঁকা রাস্তার উপর থেকে ৩০ বোতল ফেন্সিডিল সহ মোঃ গিয়াস উদ্দীন( ৩৩), নামের এক  মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে বাগআঁচড়ারপুলিশ। আটককৃত মোঃ গিয়াস উদ্দীন বেনাপোল পোর্ট  থানার পুটখালী গ্রামের মোঃ জালাল উদ্দীনের ছেলে।  

এ ব্যাপারে বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ উত্তম কুমার বিশ্বাস আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আসামীর বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দিয়ে শার্শা থানায় প্রেরণ করা হয়েছে।

চার পথ নিরাপদের দাবিতে সুনামগঞ্জে সেভ দ্য রোড-এর সমাবেশ

চার পথ নিরাপদের দাবিতে সুনামগঞ্জে সেভ দ্য রোড-এর সমাবেশ

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ  চার পথ নিরাপদ এবং ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের রশিদপুরে দুই বাসের সংঘর্ষে নিহতদের পরিবার ও আহতদেরকে সরকারি সহায়তার দাবিতে সুনামগঞ্জে সেভ দ্য রোড-এর মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বাধীনতার মাসের প্রথম দিন সকালে সুনামগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী জাউয়াবাজারে শাখা সভাপতি আহমদ আল কবির চৌধুরীর সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক গৌছুল হক নাঈমের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সহ সভাপতি জয়নাল আবেদীন জয়, সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়েজ মারজান, মাওলানা ফয়জুল আমিন ফয়েজ ও জনাব আবুল কালাম প্রমূখ। উপস্থিত ছিলেন, এস আই তোফাজ্জল হোসেনে (গোয়েন্দা কর্মকর্তা) ও সমাজের সর্বস্তরের জনগণ।

এসময় নেতৃবৃন্দ বলেন, নিরাপদ ৪ পথের দাবিতে বিভিন্ন কর্মসূচীর পাশাপাশি ৭ দফা দাবি নিয়ে সচেতনতা তৈরির জন্য কাজ করে যাচ্ছেন সেভ দ্য রোড-এর চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম, প্রতিষ্ঠাতা মোমিন মেহেদী, মহাসচিব শান্তা ফারজানা সহ সাড়াদেশে হাজার স্বেচ্ছাসেবি; ৪ পথ নিরাপদ হবেই ইনশাল্লাহ। পথ দূর্ঘটনায় আহতদেরকে কমপক্ষে ৩ লাখ ও নিহতদের পরিবারকে ১০ লক্ষ করে টাকা দেয়ারও দাবি বাস্তবায়ন হবে বলে আমরা বিশ^াস করি। 

জাতীয় প্রেস ক্লাবে মোমিন মেহেদীকে লাঞ্ছিতর ঘটনায় উদ্বেগ

জাতীয় প্রেস ক্লাবে মোমিন মেহেদীকে লাঞ্ছিতর ঘটনায় উদ্বেগ


প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ  জাতীয় প্রেস ক্লাবের কর্মচারি সাইফুর ও সহযোগি কর্তৃক মোমিন মেহেদীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়েছেন বিভিন্ন মহল। নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির প্রেসিডিয়াম মেম্বার ভাষাসৈনিক-বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান আজাদ, ভাষাসৈনিক ফজলুল হক, ভাষাসৈনিক রেজাউল করিম, সেভ দ্য রোড-এর চেয়ারম্যান ও সোনাগাজী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম, অনলাইন প্রেস ইউনিটির উপদেষ্টা অধ্যাপক শুভঙ্কর দেবনাথ, মানবাধিকার বাংলাদেশ-এর চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা ও মহাসচিব সোনিয়া দেওয়ান প্রীতি, প্রবাসী সাহিত্যিক পরিষদের সভাপতি প্রকৌশলী এসবিএম ইকবাল, অস্ট্রেলিয়া সাংস্কৃতিকধারার সভাপতি বেলাল ঢালী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন মাস্টার, মেহেন্দীগঞ্জ জেলা বাস্তবায়ন পরিষদের পৃষ্টপোষক নিজাম উদ্দীন আহমদ প্রমুখ।
উল্লেখ্য, মোমিন মেহেদীর প্রথম লেখা প্রকাশিত হয় ১৯৯৫ সালে দৈনিক ইত্তেফাকে। কাজ করেছেন দৈনিক যুগান্তর, দৈনিক সমাচার, দৈনিক খবরপত্র সহ বিভিন্ন কাগজে। পেশাগতভাবে যুক্ত রয়েছেন প্রকাশনা ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সাউন্ডবাংলা'র নির্বাহী পরিচালক হিসেবে। ২০০৫-৬ সালে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় ছাত্র অধিকার আন্দোলন জোটের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বপালনকারী মোমিন মেহেদীর নেতৃত্বে ২০১২ সালের ৩০ ডিসেম্বর হাজার নেতাকর্মীর রেডর‌্যালীতে আত্মপ্রকাশ করে নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবি। নির্বাচন কমিশনে আবেদনকৃত এই রাজনৈতিকধারা দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে-দুর্নীতি বন্ধের দাবি সহ বিভিন্ন গণমূখি ইস্যুতে রাজপথে থেকেছে সবসময়। করোনা পরিস্থিতিতে বিভিন্ন দাবি আদায়ে অনশন করার পাশাপাশি ক্ষুধার্তদেরকে খাদ্য সামগ্রী দিয়ে অবিরাম পাশে ছিলো।
বিভিন্ন দৈনিকে কলাম লিখে চলা বহুগ্রন্থ প্রণেতা-রাজনীতিক মোমিন মেহেদী গত ২৮ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ৬ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক অনুষ্ঠান শেষে বের হওয়ার সময় অতর্কিত তাঁর উপর হামলা করে সাইফুর ও তাঁর সহযোগিরা। এসময় তাঁর সাথে থাকা কবি বিমল সাহা সহ অন্যান্যরা হামলাকারিদেরকে নিবৃত করেন। এ বিষয়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি কবি হাসান হাফিজকে মুঠোফোনে জানানো হলে তিনি বিষয়টি দেখছেন বলে জানান। পরে যেহেতু জাতীয় প্রেসক্লাবের মত একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানে ন্যাক্কারজনক এই ঘটনা সংগঠিত হয়েছে, সেহতেু আইনের দ্বারস্থ না হয়ে প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে লিখিত আবেদন করার সময় সাধারণ সম্পাদক বরেণ্য সংবাদযোদ্ধা ইলিয়াস খান দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
অন্যদিকে নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির ৪৪ জেলা, ১০২ উপজেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ জাতির বিবেক খ্যাত সাংবাদিকদের আশ্রয়স্থল জাতীয় প্রেস ক্লাবের মত প্রতিষ্ঠানে নতুনধারার রাজনীতির প্রবর্তক কলামিস্ট মোমিন মেহেদীর সাথে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার না পেলে আইনের আশ্রয় নেয়ার পক্ষে সমর্থন দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন নতুনধারার মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রি।                                       

রুদ্র অয়ন এর কবিতা ভালোবাসার ডাক

রুদ্র অয়ন এর কবিতা     ভালোবাসার ডাক

হৃদয়ের কাঙ্খিতে
ভাবনারও আদিতে
তোমাকে করেছি কল্পনা, 

একান্তই গোপনে
শয়নে ও স্বপনে
আঁকি প্রেমের আল্পনা। 

কল্পণারই মূলে
জানিনে আমি কি ভুলে
তোমাতেই যে মগ্ন থাকি,

এ বসন্ত ক্ষণে
আমি মন থেকে মনে
তোমাকেই ভালোবেসে ডাকি।  

রুদ্র অয়ন এর ছোটগল্প আকাঙ্খা

রুদ্র অয়ন এর ছোটগল্প  আকাঙ্খা

কথাটা কিভাবে শুরু করবে বুঝে ওঠতে পারছেনা আকাঙ্খা। খাবার টেবিলে বসে মায়ের দিকে একবার তাকায়। ইশারায় কথাটা বাবাকে বলতে বলে। মা সংশয় নিয়ে বাবার দিকে তাকিয়ে বললেন, 'আকাঙ্খা, ওর বন্ধু বান্ধবরা মিলে কয়েকদিনের জন্য সিলেট,জাফলং যাবে সেজন্য কিছু টাকা চাইছিলো।'

আকাঙ্খার দিকে তাকিয়ে বাবা বললেন, 'কত দিতে হবে?'

'দশ হাজারের মত।' আমতা আমতা করে বললো আকাঙ্খা।কবে যাবি?'

'এই তো ৪ দিন পর যাবো।'

বাবা নিচের দিকে তাকিয়ে খেতে খেতে বললেন, 'তাহলে এক কাজ কর, দুইটা দিন দোকানে একটু সময় দে। আমি দুই দিনের জন্যে এক জায়গায় যাবো। এসে তোর টাকাটা দেবো, হবে তো?'

'আচ্ছা বাবা।' মনে মনে বেজায় খুশি হলো আকাঙ্খা।

পরের দিন সকালে দোকানে গেলো সে। খুব বড় না হলেও মোটামুটি মাঝারি ধরণের একটা তৈরি পোষাকের দোকান তাদের। মাঝে মধ্যে আকাঙ্খা দোকানে এলেও সেভাবে কখনও দোকানে বসা হয়নি। আজকে প্রথম দোকানে বসলো। দোকানে তিনজন কর্মচারী রয়েছে। ওরা আকাঙ্খাকে সব বুঝিয়ে দিচ্ছে। তার কাজ হলো কোন কাপড়ে কত টাকা লাভ হয়েছে সেটা লিখে রাখা আর মাঝে মাঝে কাস্টমারদের পোষাক দেখানো।

একজন কাস্টমারকে ২৫টার মত শার্ট দেখানোর পর কাস্টমারটা বললো, 'না ভাই, পছন্দ হচ্ছেনা।'

আকাঙ্খা অবাক হয়ে বলে, 'এত গুলোর শার্টের মাঝেও পছন্দ হয়নি?'

কাস্টমার বললেন, 'না।'

মনটা খারাপ করে যখন শার্ট গুলো গুছিয়ে রাখছিলো তখন কর্মচারী এক ছেলে হেসে বললো, 'ভাইয়া, মন খারাপ করে থাকলে হবেনা। সব সময় হাসি মুখে কাস্টমারের সাথে কথা বলতে হবে।'

কিছুক্ষণ পরে আরেকজন কাস্টমার এসে বললো, কিছু লেটেস্ট ডিজাইনের প্যান্ট দেখাতে। আকাঙ্খা দোকানের কিছু ভালো মডেলের প্যান্ট দেখালো। কাস্টমার ছেলেটি একটা প্যান্ট পছন্দ করলো। প্যান্টের ক্রয় মূল্য ছিলো ৯৫০ টাকা। আকাঙ্খা কাস্টমারের কাছে ১১৫০ টাকা চাইলো। ছেলেটা প্যান্ট উল্টে পাল্টে দেখে বললো, '৪০০ টাকা দিবেন?'

কাস্টমারের কাছে দাম শুনে মেজাজটা খারাপ হয়ে গেলো। দাঁতের সাথে দাঁত চেপে নিজের রাগটা নিজে কন্ট্রোল করে মুখে হাসি এনে বললো, 'না, ভাইয়া, এত কম দামে এই প্যান্ট হবেনা।'

একটুপরে এক মহিলা কাস্টমার এসে ২ ঘন্টা ধরে দোকানের প্রায় সমস্ত কাপড় চোপড় উল্টে পাল্টে দেখে ২টা শাড়ি কাপড় পছন্দ করে বললো, 'আমার স্বামী ২দিন পর বেতন পাবে তখন এই দুইটা কাপড়ের দাম দিয়ে গেলে হবে?'

রাগটা তখন সপ্তমে ওঠে গেলো। তারপরও কিছু বলতে পারছেনা আকাঙ্খা। কাস্টমার বলে কথা। রাগটা ছাই চাপা দিয়ে মুচকি হেসে বললো, 'আন্টি, যেদিন আংকেল বেতন পাবেন সেদিন আংকেল কে নিয়ে না হয় শাড়ি নিয়ে যাবেন।'

এক উঠতি বয়সি ছেলে কাস্টমার সম্ভবত তার বান্ধবীকে সাথে নিয়ে দোকানে এসেছে। কর্মচারী ছেলেগুলো যে থ্রিপিস গুলোই দেখায় সেগুলো দেখে বলে আরো ভালো মানের কাপড় দেখাতে। অবশেষে কর্মচারী ছেলেটা বললো, 'এর চেয়ে ভালো মানের কাপড় আমাদের দোকানে নেই।'

ছেলেটা মুখে একরাশ বিরক্তি এনে বললো, 'দূর, শুধু শুধু এমন একটা ফকিন্নি দোকানে সময় নষ্ট করলাম!'

আর কত সহ্য করা যায়! আকাঙ্খা এবার বলে বসলো, 'ভাই,আপনি বিশাল ধনি ঘরের ছেলে। এসব নরমাল জিনিস আপনার পছন্দ নয়, তাহলে যমুনা ফিউচার পার্ক, বসুন্ধরা
এই গুলো বাদ দিয়ে শুধু শুধু কেন এই সব সাধারণ শপিংমলে ঘুরাঘুরি করছেন?'

কাস্টমার ছেলেটার সাথে যখন কথা কাটাকাটি হচ্ছিলো তখন একজন কর্মচারী ছেলে ঐ কাস্টমার ছেলের কাছে মাফ চেয়ে বুঝিয়ে শুঝিয়ে বিদায় করলো। তারপর আকাঙ্ক্ষার দিকে চেয়ে বললো, 'ভাইজান এমন করলে তো ব্যবসা হবে না। প্রতিদিন কত মানুষের কত রকম কথা শুনতে হবে। আপনি আজ প্রথম এসেছেন তাই অতশত বুঝছেন না।

দিন শেষে আকাঙ্খা হিসেব করে দেখে খরচ বাদ দিয়ে লাভ হয়েছে ৫০০ টাকা।আকাঙ্খা দুই দিন দোকান দেখাশুনা করে। এই দুই দিনে আয় হয় ৩৪০০ টাকা! আর এই দুই দিনে যে পরিমাণ কষ্ট হয়েছে মনে হয় না আগে আকাঙ্খা জীবনে এত কষ্ট করেছে।

আকাঙ্খা অনার্স ফাইনাল পরীক্ষা দিয়েছে। হাতে বেশ কিছুদিন সময়। এই অবসরে একটু জাফলং ঘুরে আসার পরিকল্পনা করেছে কয়েকজন বন্ধু মিলে। কোনও বাজে সঙ্গ বা বাজে কোনও অভ্যাস নেই তার। বাজে কোনও ছেলের সাথে মিশেও না। পড়াশোনা এবং স্বভাব চরিত্র আচার ব্যবহারে ভাল গুটিকয়েক ছেলের সাথে একটু সখ্যতা আকাঙ্ক্ষার। বাজে সংসর্গ বা যা কিছু মন্দ তা বর্জন করে চলে প্রতিনিয়ত আর যা কিছু ভাল তা গ্রহন করে । সত্য সুন্দর এবং আলোকিত পথেই চলতে চেষ্টা করে সর্বদা। সর্বপরি একজন মানুষের মত মানুষ হওয়ার চেষ্টা।

রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে ড্রয়িং রুমে বসে টিভি অন করে আকাঙ্খা। এমন সময় বাবা এসে বললেন, 'এইযে নে তোর ১০ হাজার টাকা।'

আকাঙ্খা বাবার দিকে তাকিয়ে বলে, 'কিসের টাকা?'

বাবা বিস্ময় কণ্ঠে বলেন, 'তুই না জাফলং যাবি বন্ধুদের সাথে?'

বাবার দিকে তাকিয়ে আকাঙ্খা বললো, 'বাবা আমি আগে জানতামই না টাকা ইনকাম করতে কতটা কষ্ট হয় তাই তোমার কাছে কত কিছু আবদার করতাম। আমি এই দুই দিনে খুব ভালো করেই বুঝতে পেরেছি টাকা ইনকাম করার কি কষ্ট। যে আমি দুই দিনে ৪ হাজার টাকাও ইনকাম করতে পারলাম না সেই আমি ১০ হাজার টাকা কিভাবে আবদার করি। এত টাকা খরচ করা আমাদের মত মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য অপচয় বাদে কিছুই নয় বাবা।'

কথাগুলো শুনে বাবা কিছুটা রাগি গলায় বললেন, 'এত পাকামী কথা বলতে হবেনা। বন্ধুরা সবাই যাচ্ছে তুইও যা। জাফলংএর পাহাড় আর আকাশের বিশালতা দেখলে তোর খুব ভালো লাগবে।'

বাবার হাত ধরে আকাঙ্খা বললো, 'পাহাড় কিম্বা আকাশের বিশালতা দেখতে জাফলং বা সমুদ্রে যেতে হয় না। বাবার চোখের দিকে তাকালেই বিশালতা দেখা যায়। যে বাবারা হাজার কষ্টেও সন্তানের মুখে হাসি ফোটাতে চেষ্টা করেন সেই বাবাদের স্যালুট। আল্লাহ সকল বাবা মায়েদের সুস্থ রাখুন, ভাল রাখুন। বাবা মানে শুধু বাবা নয়, বাবা মানে বটবৃক্ষ ; বাবা মানে মাথার ওপর ছাদ। বাবা মা না থাকলে আজ আমার ঠাঁই হতো এতিমখানায় বা ফুটপাতে। আল্লাহর কাছে হাজার শুকরিয়া আমার মা আছেন, আমার বাবা আছেন। আমি যেন বাবা মায়ের মূল্যায়ন করে চলতে পারি আল্লাহ আমাকে সেই ক্ষমতা দান করুন আল্লাহর কাছে এই প্রার্থনা।'

একটুক্ষণ নিরব থাকার পরে আকাঙ্খা আবার বললো, 'বাবা, দোকানে এতজন কর্মচারী রাখার কোন দরকার নেই। আজ থেকে আমি দোকানে বসবো।'

বাবা কোন উত্তর না দিয়ে চোখ কচলাতে কচলাতে বললেন, 'দূর, চোখে যে কি পড়লো হঠাৎ!'

আকাঙ্খা বুঝতে পারে চোখে কিছু পড়েনি। বাবা চোখের জল লুকোনোর জন্যে মিথ্যা বলছেন।

আসলে বাবা মায়েরা এমনই ; কখনো নিজেদের কষ্ট সন্তানদের বুঝতে দেন না। 

যশোরের বাঘারপাড়ার ভৈরব নদীর তোলা মাটি বিক্রয় ঠেকাতে স্থানীয়দের জোর দাবী

যশোরের বাঘারপাড়ার ভৈরব নদীর তোলা মাটি বিক্রয় ঠেকাতে স্থানীয়দের জোর দাবী

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের বাঘারপাড়া বসুন্দিয়া, ঘুনির ঘাট,ছাতিয়ানতলা,দায়তলাসহ ভৈরব নদের দুপাড়ের মাটি কেটে সাবাড় করছে স্থানীয় জমির মালিকরা। ঘুনির ঘাট এলাকায় সরেজমিনে যেয়ে  দেখা মেলে তার সত্যতা।  যশোর সদর উপজেলা ও বাঘারপাড়া উপজেলার মাঝখানে ভৈরব নদের খনন কাজ চলছে। 

আর এই খনন কাজের মাটি ফেলা হচ্ছে দু" পাড়ে, আর এই নদীর পাড়ে জমির মালিকা এই সুযোগটি কাজে লাগিয়ে বাধা মাটি বিক্রয় করে ওই নদী থেকে তুলা মাটি দিয়ে তাদের বিক্রয় করা মাটির গর্ত আবার ভরাট করছে। এছাড়া এসব মাটি এক উপজেলা থেকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে অন্য উপজেলায় । এসব মাটি দিয়ে তৈরি হচ্ছে বিভিন্ ইটের ভাটায় ইট। দিন রাত সকল রোডে বিভিন্ন ট্রাক্টর, টলি, মিনি ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচলে এসব এলাকার সকল রোড গুলো চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। ধুলাবালিতে দু" পাড়ের বসত বাড়িসহ গাছ পালা দেখে চেনার উপয় নেই বল্লেই চলে। 

এতে করে স্থানীয়রা ভাবছেন যেমন পরিবেশ দুষণ হচ্ছে তেমনি নদীর পাড়ও ভেঙ্গে বছর না যেতেই আবার ভরাট হয়ে নদী পূর্বের ন্যায় মরাই থেকে যাবে। স্থানীয় জমির মাটি বিক্রেতা বলছেন নদী খনন কাজের ঠিকাদাররা এসব মাটি বিক্রয় করে নাকি তাদের খানা খন্দে পরিনত করতে বলেছেন, কারণ এতো মাটি ফেলবে কোথায়। তাই নদীর পাড়ে জমির মালিকরা এসব মাটি বিক্রয় করে নদী থেকে তুলা মাটি দিয়ে আবার এসব গর্ত ভরাট করে নিচ্ছেন। 

এবিষয়ে ভুমিকা নিতে এলাকা বাসী সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন প্রেরণ করেছেন।  বিষয়টি বিবেচনা করে আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের ব্যবস্থা নিতে ৮নং বাসুয়াড়ী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু সাঈদ সরদার ও স্থানীয় সচেতন মহলের জোর দাবী।

আত্রাইয়ে তথ্যকেন্দ্রের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত

আত্রাইয়ে তথ্যকেন্দ্রের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত

রাজশাহী ব্যুরোঃ
নওগাঁর আত্রাইয়ে আপা তথ্য কেন্দ্রের আয়োজনে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে মহিলাদের ক্ষমতায়ন প্রকল্প(২য় পর্যায়) উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সোমবার ১১টায় উপজেলার ঘোষপাড়া গ্রামের আলহাজ্ব মো.কায়েম উদ্দিন সরদারের বাড়ীতে এ বৈঠক হয়।
তথ্য আপা কেন্দ্রের কর্মকর্তা দিলরুবা জান্নাতের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইকতেখারুল ইসলাম তার বক্তব্যে বলেন, তথ্যকেন্দ্রের মাধ্যমে সেবা প্রধানের পাশাপাশি সেবা গ্রহিতাদের জন্য উঠান বৈঠকের আয়োজন করে গ্রামীণ তৃণমূল নারীদের আধুনিক প্রযুক্তির সম্পর্কে সচেতন করা হচ্ছে। প্রতিটি উঠান বৈঠকে ৪০ থেকে ৫০ জন গ্রামীণ নারী অংশ নিয়েছেন।
এ সময় তিনি আরো বলেন, স্বাস্থ্যগত সমস্যা, বাল্যবিবাহ, ফতোয়া, নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা চাকুরি সংক্রান্ত তথ্য, আইনগত সমস্যা এবং ডিজিটাল সেবাসূমহের নানা দিক সম্পর্কে অবহিত করে যাচ্ছে তথ্য আপা কেন্দ্র।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আত্রাই থানার ওসি মো.আবুল কালাম আজাদ। তিনি তার বক্তব্যে বলেন-বাংলার নারীরা অবহেলিত,বিভিন্ন ভাবে নির্যাতনের শিকার।প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নারীদের জন্য নানা পদক্ষেপ হাতে নিয়েছেন। নারীদের ক্ষমতায়ন, নারী শিক্ষা ও নারীদের স্বাস্থ্য ও চিকিৎসার জন্য তিনি প্রশংসার দাবিদার। নারীদের বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে নারীদের সচেতন হয়ে কর্মমুখী কাজের ও  নারীদের আইন বিষয়ে যাবতীয় সমস্যার সমাধান করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন আত্রাই  উপজেলার সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো.সাইফুল ইসলাম,সাংবাদিক ও সম্পাদক এমরান মাহমুদ প্রত্যয়,সাংবাদিক আবু হেনা মোস্তফা কামাল, উপজেলা
তথ্য সেবা সহকারী মনিরা খাতুন,অফিস সহকারী সফল কুমার প্রমূখ।

সিতোরিউ কারাতে অ্যাসোসিয়েশনের ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

সিতোরিউ কারাতে অ্যাসোসিয়েশনের ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি.
কুমিল্লা লাকসাম সিতোরিউ কারাতে অ্যাসোসিয়েশনের ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী কেক কেটে পালন করা হয়। (১লা মার্চ) সোমবার বিকালে লাকসাম প্রেস ক্লাবে ।প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিভিন্ন সংগঠন কারাতে অ্যাসোসিয়েশনের নবগঠিত নেতৃবৃন্দকে ফুল দিয়ে সংবর্ধিত করেন। সংগঠনগুলো হলো- ভিক্টোরি অব হিউম্যানিটি অর্গানাইজেশন, রৌদ্রছায়া যুব সমাজ সংস্থা, উত্তরকুল কিশোরী ক্লাব, নিশ্চিন্তপুর যুবমহিলা সমিতি।
 উক্ত সংগঠনের নবনির্বাচিত সভাপতি নাজমুন নাহার নুপুরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন লাকসাম শিল্পকলা একাডেমি ও লাকসাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এড. মোঃ রফিকুল ইসলাম হিরা।
বিশেষ অতিথি ছিলেন লাকসাম পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড এর কাউন্সিলর মোঃ আবদুল আজিজ। বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ আইন সহায়তা কেন্দ্র (বাসক) লাকসাম উপজেলা শাখার সভাপতি মোঃ নুরে আলম (মানিক), কারাতে অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান প্রশিক্ষক মোঃ কামরুল হাসান, লাকসাম অনলাইন শপ এর প্রতিষ্ঠাতা তৌহিদুল ইসলাম রবিনসহ লাকসাম কারাতে অ্যাসোসিয়েশনের শিক্ষার্থীবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে ২০২১-২৩ সেশনের জন্য লাকসাম সিতোরিউ কারাতে অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান উপদেষ্টা বিশিষ্ট সংগঠক ও সামাজিক ব্যক্তিত্ব এড. মোঃ রফিকুল ইসলাম হিরা নবগঠিত কমিটির নাম ঘোষণা করেন। নবগঠিত কমিটিতে নাজমুন নাহার নুপুরকে সভাপতি, মোঃ কামরুল হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটির অন্যান্যরা হলেন- সহ সভাপতি যথাক্রমে শরিফুল আলম, মোঃ খোরশেদ আলম বিপ্লব, মোঃ আব্দুল্লাহ, কোষাধ্যক্ষ মোঃ হাসান, নির্বাহী সদস্য আব্দুল্লাহ আল মামুন।

দৌলতখানে অসহায় নারীদের সেলাই মেশিন দেওয়ার নামে অর্থ লোপাট

দৌলতখানে অসহায় নারীদের সেলাই মেশিন দেওয়ার নামে অর্থ লোপাট

মোঃ আওলাদ হোসেন স্টাফ রিপোর্টার,দৌলতখান, ভোলাঃপ্রতারক মাহাবুব আলম ও মাকছুদুর রহমানের নামে ভোলার দৌলতখান উপজেলার শতাধিক অসহায় নারীর কাছ থেকে দর্জির কাজ শেখানো ও সেলাই মেশিন দেওয়ার নাম করে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। নিজেদের অর্থ ফেরত ও প্রতারক চক্রের দুই সদস্য মাহাবুব আলম ও মাকছুদুর রহমানের বিচারের দাবিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী ঐ অসহায় নারীরা।
 
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, প্রতারক চক্রের ঐ দুই সদস্য ভোলা সদর উপজেলার বাপ্তা ইউনিয়নের বাসিন্দা। তারা দীর্ঘদিন ধরে প্রত্যন্ত অঞ্চলের অসহায় নারীদের স্বাবলম্বী করার কথা বলে কেন্দ্র খুলে দর্জি শেখান। দুই মাসের কোর্সে এসব নারীদের ১৫০ টাকা করে ভর্তি করানো হয়। এমনকি ভর্তি হওয়ার পর ১২০০ টাকা জমা দিলে এক সপ্তাহের মধ্যে একটি সেলাই মেশিন দেয়া হবেও বলে প্রতিশ্রুতি দেন। ১২০০ টাকা এই চক্রের হাতে পৌঁছানোর পর তাদের ব্যবহৃত নাম্বারটিও বন্ধ করে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। যার কারনে ভুক্তভোগীরা এই প্রতারক চক্রের খোঁজ পান না।
সম্প্রতি ভোলার দৌলতখান উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মাতাব্বর বাড়ী, বাগান বাড়ি, ভুট্ট মিস্ত্রী বাড়ি, ঢাকায়া মান্নান বাড়ি, হাজিপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশের বাড়ি, এসব বাড়ি থেকে নারীদের অর্থ আত্মসাৎ করেছেন।

প্রতারনার শিকার নারীরা একজন লাবলি বেগম জানান, 'প্রতারক চক্র তাদেরকে ১২০০টাকা দিয়ে সেলাই মেশিন দেয়ার নামে দর্জি কাজে ভর্তি করেন। অনেকে স্বর্ণালংকার বন্ধক রেখে তাদের টাকা দিয়েছেন। এসব অসহায় নারীরা তাদের অর্থ ফেরত ও প্রতারকদের শাস্তির দাবি করছেন। আর না হয় এভাবে তাদের মতো অনেক অসহায় নারী প্রতারনার শিকার হতে পারেন বলে তারা মন্তব্য করেন। 
এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারীরা তাদের অর্থ ফেরত ও প্রতারকদের শাস্তির দাবি করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। দৌলতখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. কাওছার হোসেন জানান, 'এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রাজাপুরে বিমা দিবসে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

রাজাপুরে বিমা দিবসে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুর পরিষদের সভা কক্ষে সোমবার সকালে ''মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার বীমা হোক সবার এ প্রতিপাদ্যে জাতীয় বীমা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা  চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মনিরউজ্জামান। ইউএনও মোঃ মোক্তার হোসেনের সভাপতিত্বে এবং পপুলার লাইস ইনস্যুরেন্স কোম্পানীর রাজাপুৃর আঞ্চলিক কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম মাসুদের সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ডেলটা ইনস্যুরেন্সেরে রাজাপুরের কর্মকর্তা মোঃ আহসান কবির মামুন, প্রাইম ইনস্যুরেন্স এর মোঃ কামরুল কবির মিঠু,  ফারইস্ট ইন্স্যুরেন্স এর মোসাঃ মাহমুদা বেগম, জাকির হোসেন (ন্যাশনাল) মোঃ মাসুদুর রহমান (মেঘনা) মোঃ আঃ শুক্কুর (পদ্মা) প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ইন্স্যুরেন্স কম্পানির কর্মকর্তা ও মাঠ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আজ থেকে দুই মাস ইলিশ মাছ ধরা নিষিদ্ধ

আজ থেকে দুই মাস ইলিশ মাছ ধরা নিষিদ্ধ

মোঃ আওলাদ হোসেনঃ আজ সোমবার (১ মার্চ) থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের ছয়টি জেলার পাঁচটি ইলিশ অভয়াশ্রমে ইলিশসহ সবধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ থাকবে। জাটকা সংরক্ষণে গতকাল রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়েছে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. ইফতেখার হোসেনের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাটকা সংরক্ষণে ১ মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের ছয়টি জেলার পাঁচটি ইলিশ অভয়াশ্রমে ইলিশসহ সবধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ থাকবে। এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় বরিশাল, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, ভোলা, শরীয়তপুর ও পটুয়াখালী জেলার ইলিশ অভয়াশ্রম সংশ্লিষ্ট নদ-নদীতে ইলিশসহ সব ধরনের মাছ ধরা বন্ধ থাকবে।

পাঁচটি অভয়াশ্রম এলাকা হলো- চাঁদপুর জেলার ষাটনল থেকে লক্ষ্মীপুর জেলার চর আলেকজান্ডার পর্যন্ত মেঘনা নদীর নিম্ন অববাহিকার ১০০ কিলোমিটার এলাকা; ভোলা জেলার মদনপুর বা চর ইলিশা থেকে চর পিয়াল পর্যন্ত মেঘনা নদীর শাহবাজপুর শাখা নদীর ৯০ কিলোমিটার এলাকা; ভোলা জেলার ভেদুরিয়া থেকে পটুয়াখালী জেলার চর রুস্তম পর্যন্ত তেঁতুলিয়া নদীর প্রায় ১০০ কিলোমিটার এলাকা।

এছাড়া শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া ও ভেদরগঞ্জ উপজেলা এবং চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলার মধ্যে অবস্থিত পদ্মা নদীর ২০ কিলোমিটার এলাকা এবং বরিশাল জেলার হিজলা, মেহেন্দীগঞ্জ ও বরিশাল সদর উপজেলার কালাবদর, গজারিয়া ও মেঘনা নদীর প্রায় ৮২ কিলোমিটার এলাকা।

উল্লেখ্য, অভয়াশ্রম সংশ্লিষ্ট ছয়টি জেলার জাটকা আহরণে বিরত থাকা ২ লাখ ৪৩ হাজার ৭৭৮ জন জেলেদের জন্য মাসে ৪০ কেজি করে দুই মাসে ৮০ কেজি হারে মোট ১৯ হাজার ৫০২ মেট্রিক টন ভিজিএফ চাল ইতোমধ্যে বরাদ্দ করেছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়।
স্টাফ রিপোর্টার,দৌলতখান, ভোলা

শৈলকুপায় রাস্তায় নারীকে পিটিয়ে আহত

শৈলকুপায় রাস্তায় নারীকে পিটিয়ে আহত

শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি :ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সানজিদা খাতুন (৩০) নামের এক নারীকে পিটিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা।
ঘটনাটি রবিবার বিকাল ৩টার দিকে উপজেলা ৫নং কাঁচেরকোল ইউনিয়নের কাঁচেরকোল ভোট কেন্দ্রের দক্ষিন দিকের রাস্তায়। উপজেলা উপ নির্বাচনে ভোট দিতে আসার সময় তাকে পিটিয়ে আহত করা হয় ও
তার কাছ থেকে স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন আহত নারীর পরিবার। ঘটনার পর স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।
আহত নারীর পিতা মো: ওমর আলী জানান, তিনি শনিবার জামাই বাড়ি বেড়াতে আসেন। তার জামাই ও পরিবারের সদস্যরা আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। মেয়ে সানজিদা বিকাল ৩টার দিকে ভোট
দিতে আসার সময় একই গ্রামের বিভিন্ন অপকর্ম ও মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত মনিরুজ্জামান মনির, তার পিতা ডাবলু ও নানা আকবার
শেখ তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে তার কানের দুল, হাতের চুরি ছিনিয়ে নেয়। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ঝিকরগাছার আট বছরের মেয়ে কোহিলীর পায়ের চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন

ঝিকরগাছার আট বছরের মেয়ে কোহিলীর পায়ের  চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার ৭নং নাভারণ ইউনিয়নের বাইশা গ্রামের ভ‍্যান চালক পিতা নুরনবী মেয়েকে বাঁচাতে সমাজের হৃদয় বান ও বিত্তশালী মানুষের নিকট আর্থিক সহযোগিতা চেয়েছেন।

পড়াশোনার প্রতি প্রবল আগ্রহ অসহায় পিতা নুরনবীর মেয়ে কোহিলীর গাছের ডাল পড়ে বাম পায়ের মাজার নিচে থেকে হাঁটু পর্যন্ত তিনটি স্থানের হাড় ভেঙে গিয়েছে। প্রাথমিকভাবে কোহিলি বাবা সর্বোচ্চ সামর্থ্য অনুযায়ী মেয়ের চিকিৎসা করেছেন। কিন্তু বর্তমানে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী অপারেশন, উন্নত চিকিৎসা এবং মেয়েকে হাসপাতালে ভর্তি রাখতে হবে। আর এজন্য প্রয়োজন প্রায় ১ লক্ষ টাকার। আর্থিকভাবে অসচ্ছল ভ্যানচালক নুরনবীর এই টাকা জোগাড় করা অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি নুরনবীর তিন মেয়ে ও একটি ছেলে এর মধ্যে কোহিলী ও কাকলী জমজ দুই বোন। ভ্যানচালক বাবার এই স্বল্প আয় দিয়েই কোন রকমে চলে সংসার। নিতান্তই এই দরিদ্র মানুষটির বাড়ি অন্যের জায়গায় অবস্থিত।

ভ্যান চালক নূরনবীর পক্ষে কোনভাবেই চিকিৎসার খরচ বহন করা সম্ভব নয়। এমতাবস্থায় কোহিলির অসহায় ও নিরুপায় ভ্যানচালক পিতা, মেয়ের অপারেশনে সুচিকিৎসার জন্য সকল হৃদয় বান ও দানশীল ব্যক্তির কাছে সামর্থ্য অনুযায়ী সাহায্য কামনা করেছেন।কোহিলীকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা: বিকাশ নাম্বার: ০১৮১৭৮৮১৬৪১ (নূরনবী)।

কোটচাঁদপুর উপজেলার সাফদারপুর ইউনিয়ন বাসীর জীবনমান উন্নয়নে কাজ করে যেতে চান মোঃ হিরন খাঁন

কোটচাঁদপুর উপজেলার সাফদারপুর ইউনিয়ন বাসীর জীবনমান উন্নয়নে কাজ করে যেতে চান মোঃ হিরন খাঁন

তাহের খাঁন || কোটচাঁদপুর উপজেলা  প্রতিনিধি:
কোটচাঁদপুর উপজেলার ১নং সাফদারপুর
ইউনিয়ন বাসীর জীবনমান উন্নয়ন, গ্রামকে আধুনিকায়ন করার প্রত্যয় ও আধুনিক ডিজিটাল ইউনিয়ন পরিষদ গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে তাদের পাশে থেকে সেবা করে যেতে চান কোটচাঁদপুর উপজেলার ১নং সাফদারপুর ইউনিয়নের তরুণ সমাজ সেবক ও সাবেক ছাত্র নেতা মোঃ হিরন খাঁন (টুটুল)তিনি সাফদারপুর ইউনিয়ন বাসীর পাশে থেকে কাজ করার প্রত্যাশা নিয়ে দলীয়(আওয়ামীলীগ) মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করতে ইউনিয়নের জনসাধারণের মাঝে প্রচার ও প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।
জানা গেছে, ইউনিয়ন বাসীর পাশে থেকে দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষা,সাংস্কৃতি ও অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে থেকে সমাজসেবা মূলক কার্যক্রমে বিশেষ অবদান রাখায় বিশেষ করে প্রাণঘাতী করোনা কালীন সময়ে ইউনিয়নের কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষের পাশে থেকে ব্যক্তিগতভাবে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করে নজির সৃষ্টি করে অনেক আগেই ইউনিয়ন বাসীর মনে জায়গা করে নিয়েছেন যার ফলে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহণের কথা শুনে ইতিমধ্যে ডিজিটাল ইউনিয়ন পরিষদের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে সাফদারপুর ইউনিয়ন বাসী।
ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী তরুণ সমাজ সেবক ও সাবেক ছাত্র নেতা মোঃ হিরন খাঁন (টুটুল)বলেন আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আমি গ্রামকে শহরে রুপান্তর করার অঙ্গীকার নিয়ে ১নং সাফদারপুর ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের পাশে থেকে তাদের সেবা করে যেতে চাই।
আমি জনগণের শাসক হতে চাইনা আমি জনগণের সেবক হতে চাই।
আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রতিশ্রুতি নিয়ে তাহার একজন ক্ষুদে সমর্থক হিসাবে ১নংসাফদারপুর ইউনিয়নকে আধুনিক ডিজিটাল ইউনিয়ন ও মাদক মুক্ত ইউনিয়ন পরিষদ গড়ার লক্ষ্যে সকলকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই।
এসময় ইউনিয়ন বাসীর নিকট দোয়া ও সবাইকে পাশে থাকার আহবানও জানিয়েছেন তিনি।

সুন্দরবন ধ্বংস হলে আগামী প্রজন্ম না খেয়ে মারা যাবে-মোংলায় সিটি মেয়র খালেক

সুন্দরবন ধ্বংস হলে আগামী প্রজন্ম না খেয়ে মারা যাবে-মোংলায় সিটি মেয়র খালেক

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ  সুন্দরবন ধ্বংস হলে আগামী প্রজন্ম না খেয়ে মারা যাবে। সুন্দরবনকে বাঁচান, নিজে বাঁচুন, আগামী প্রজন্মকে বাঁচান। পরিবেশকে সুরক্ষা করেই চলতে হবে। সুন্দরবন মায়ের মতো আগলে রাখে। সুন্দরবন থাকলে আপনি থাকবেন। বার বার বলেছি সুন্দরবনকে ধ্বংস করবেন না। বিষ দিয়ে যারা মাছ মারে তাদের মতো জঘন্য লোক আর নেই। ১ মার্চ সোমবার সকালে মোংলার বৈদ্যমারি বাজারে সুন্দরবন সংলগ্ন চিলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি কপোর্রেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক একথা বলেন।

সোমবার সকাল ১১টায় কর্মী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন চিলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মিহির কুমার ভান্ডারী। কর্মী সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন বাগেরহাট জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সাবেক রামপাল উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোল্লা আব্দুর রউফ, জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সহ-সভাপতি সাবেক মোংলা উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ ইদ্রিস আলী ইজারদার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সুনীল কুমার বিশ্বাস, মোংলা উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন। কর্মী সমাবেশে অন্যান্যদের বক্তব্য রাখেন চিলা ইউপি চেয়ারম্যান গাজী আকবর হোসেন, চাঁদপাই ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম, চিলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ নজরুল ইসলাম হাওলাদার, সরদার হুমায়ুন বাবর, মোঃ শফিকুল ইসলাম রাসেল, মাফতুম হাওলাদার, দিলিপ মন্ডল, আনোয়ারুল ইসলাম রিপন, যুবলীগ নেতা সামছুর রহমান, ছাত্রলীগ নেতা মোঃ মোছা ফকির প্রমূখ। কর্মী সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান জসিম, মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইস্রাফিল হোসেন হাওলাদার, আওয়ামীলীগ নেতা উৎপল মন্ডল, মাহমুদ হাসান ছোটমনি, তরফদার মোত্তালিব মুক্ত, পৌর কাউন্সিল এস এম কবির হোসেন, শরিফ হোসেন, মোঃ বাহাদুর মিয়া প্রমূখ। কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি কপোর্রেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক আরো বলেন ইতিমধ্যে আমরা উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছি। ২০৪১ সালে উন্নত দেশ হবো। উন্নত দেশ হতে হলে সততার সাথে কাজ করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দিতে চাই। বাংলাদেশের সব জায়গায় উন্নয়ন হয়েছে। মোংলা-রামপালে ব্যতিক্রম উন্নয়ন হয়েছে। উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত থাকবে। আসন্ন ইউপি নির্বাচন প্রসংগে কর্মী সমাবেশে সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন চেয়ারম্যান পদে তৃণমূলের কাছ থেকে মতামত নিয়ে ন্যুনতম তিন সদস্যের প্যানেল তৈরি করে কেন্দ্রের কাছে পাঠাতে হবে। এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকে মনোনয়ন দিবেন তিনিই হবেন নৌকার প্রার্থী। তিনি আগামী ৭ মার্চের মধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের কাছে আগ্রহী চেয়ারম্যান-মেম্বর প্রার্থীদের আবেদন করার আহ্বান জানান।

নন্দীগ্রামে সন্ত্রাস চাঁদাবাজ মাদক কারবারী দূর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ওসি

নন্দীগ্রামে সন্ত্রাস চাঁদাবাজ মাদক কারবারী দূর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ওসি

আব্দুল আহাদ, নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ
বগুড়ার নন্দীগ্রাম থানা এলাকায় কোন সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, মাদক কারবারী দূর্নীতিবাজদের কোন ঠাই নেই বলে হুসিয়ার বার্তা দিয়েছেন নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম।  রুর‍্যাল জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন আরজেএফ ও ইউনাইটেড প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় কালে তিনি তিনি একথা বলেন। সাংবাদিকদের মাধ্যমে জনগনের উদ্দেশ্যে বলেন, থানা কোন অপরাধীর আশ্রয়স্থল নয়। আপনাদের উপর অন্যায় হচ্ছে থানায় আসুন সরাসরি আমার সাথে বলুন, কোন দালাল ধরার প্রয়োজন নেই, আপনাদের জন্য আমার দরজা সব সময় খোলা। আগে কি ভাবে থানা চলেছে আমার জানা নেই তবে আমি যতদিন আছি ততদিন থানায় জিডি, অভিযোগ কিংবা মামলা করতে কোন প্রকার টাকার প্রয়োজন নেই। থানার কোন অফিসার টাকা চাইলে সরাসরি আমাকে জানান আমি ব্যাবস্থা নিব। থানার দালালদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কোন অপরাধীর পক্ষে থানায় দালালি করতে আসলে ফিরে যেতে পারবেন না, জেলের ভাত খাওয়াবো। সকল সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদক কারবারী ও দূর্নীতিবাজদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, সবাই ভাল হয়ে যান, আমার হাতে পড়লে হায় হুতাস করতে হবে। সর্বপরি সকলের মঙ্গল কামনা করেন নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম।

মোংলার পশুর চ্যানেলে ডুবে যাওয়া কার্গো উদ্ধার কাজ শুরু হয়নি এখনও

মোংলার পশুর চ্যানেলে ডুবে যাওয়া কার্গো  উদ্ধার কাজ শুরু হয়নি এখনও

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ কয়লা নিয়ে মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলে ডুবে যাওয়া কার্গো  জাহাজ উদ্ধার কাজ এখনও শুরু হয়নি।

 এ বিষয়ে বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেছেন, মঙ্গলবার থেকে জাহাজটির উদ্ধার কার্যক্রম শুরু হবে। উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ইতিমধ্যে বরিশাল থেকে একটি উদ্ধারকারী ক্রেন মোংলার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে। এদিকে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) মোংলার আহবায়ক নুর আলম শেখ বলেন, সুন্দরবনের কাছকাছি পশুর নদে কয়লাবাহী একটি কার্গো  জাহাজ ডুবেছে। যেহেতু কয়লা একটি বিষাক্ত পদার্থ এটি নদীতে ছড়িয়ে পড়লে নদীর মাছসহ জলজপ্রাণীর মারাত্নক ক্ষতি হবে। তিনি আরো বলেন, প্রতি বছরই এই পশুর নদে কয়লা, তেল ও সার নিয়ে জাহাজ ডুবছে এসব ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের আরো সাবধানতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। 

ডুবন্ত কার্গো  জাহাজের মাষ্টার ওসমান আলী জানান, ২৭ ফেব্রুয়ারী দিবাগত রাতে প্রায় ৭শ মেট্টিক টন কয়লা নিয়ে কাগোর্ জাহাজ এম,ভি বিবি-১১৪৮ তলা ফেটে পশুর নদে ডুবে যায়। বন্দরের হাড়বাড়িয়ায় অবস্থানরত একটি বিদেশী জাহাজ থেকে কয়লা নিয়ে যশোরের নওয়াপাড়ার উদ্দেশ্যে যাওয়ার পথিমধ্যে রাত ১১টার দিকে পশুর নদের বানীশান্তা ও কানাইনগর এলাকায় পেঁৗছালে তলা ফেটে জাহাজটি ডুবে যায়। তবে এ সময় ওই জাহাজের মাষ্টারসহ ১২ জন নাবিক সাতরিয়ে নদীর কুলে উঠে যায়। 

এদিকে জাহাজটি উদ্ধার কাজ শুরু না হলেও ঘটনাস্থলে মার্কিংয়ের ব্যবস্থা করেছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।  কাজ শুরু করার কথা জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। ডুবন্ত নৌযানটি মোংলা নালা থেকে প্রায় ১ নটিক্যাল মাইল দূরে এবং বন্দরের মুল চ্যানেলের বাহিরে রয়েছে। ফলে ওই চ্যানেল দিয়ে বিদেশী জাহাজসহ সকল ধরণের নৌযান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানিয়েছে বন্দরের হারবার বিভাগ। 

তবে কার্গো  জাহাজটি ডুবে যাওয়ার পর পুরো দুইদিন পেরিয়ে গেলেও ডুবন্ত কার্গোটির উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করতে পারেনি বন্দর কর্তৃপক্ষ ও কার্গো জাহাজের মালিকপক্ষ। 

কিশোরগঞ্জে নদীর বুকে চাষাবাদ করে ভূমিহীন পরিবার বাঁচার স্বপ্নে এখন বিভোর

কিশোরগঞ্জে নদীর বুকে চাষাবাদ করে ভূমিহীন পরিবার বাঁচার স্বপ্নে এখন বিভোর

মোঃ লাতিফুল আজম,নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলার কোল ঘেঁষে প্রবাহিত চাড়াল কাটা ও ধাইজান নদী এখন যৌবন হারিয়ে সংকুচিত হয়ে মরা খালে পরিণত হয়ে পড়েছে।অথচ বর্ষা মৌসুমে হাজারো মানুষের ঘরবাড়ি ও ফসলি জমি বিলিন হয়ে যায় ওই নদীতে।আজ সময়ের সেই যৌবন হারিয়ে খরস্রোত নদীর বুক জুড়ে বোরো ধানের চাষাবাদ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।মূলত বর্ষা মৌসুমে ১/২ মাস নদীতে পানি থাকে। ওই নদী দু'টি তার আপন সত্তা হারিয়ে আগাম শুকিয়ে যাওয়ায় নদীর বুকে সাফল্য জনক ভাবে চলতি মৌসুমে বোরো ধান চাষ করছে স্থানীয় ভূমিহীন কৃষকেরা।অথচ ওই নদী দিয়ে এক সময় পাড়া পাড়ের ব্যবস্থা ছিল এক মাত্র বাহন নৌকা। দূর থেকে ভেসে আসত মাঝি-মাল্লার গান। চোখে পড়ত গ্রামের  ছোট ছেলেমেয়েদের নদীর জলে সাঁতার কাটার দৃশ্য। উপজেলার উপর দিয়ে প্রবাহিত সেই খরস্রোত নদীগুলো শুধু বর্ষাকালে কয়েকদিনের জন্য ফুটে উঠে নদীর চিত্র। এখন সেই নদীর তলায় চাষাবাদ হচ্ছে ইরি-বোরো ধান, মিষ্টি কুমড়া, মিষ্টি আলু, রসুন, পেঁয়াজসহ অনেক ফসল।হাজারও ভূমিহীন কৃষকেরা সেই যৌবন হারা নদীতে বোরো ধান চাষাবাদ করে ৫/৬ মাসের খাবারের সংস্থানে কৃষাণ-কৃষাণীরা নদীর তলায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। বর্ষাকালের পানি ও ফসলি জমির আর্দ্রতা ধরে রাখে একমাত্র ওই নদী গুলো। বর্ষা মৌসুমে প্রাকৃতিক পানি নিষ্কাশন হয়ে থাকে এই নদী  গুলো দিয়ে। 
এলাকাবাসী জানান, জলবায়ুর পরিবর্তন আর প্রাকৃতিক বিরুপ প্রভাবের কারণে নদী গুলোর বাস্তব চিত্র সবুজে ঘেরা ফসলের মাঠে পরিণত হয়েছে। উপজেলার পুটিমারী কালিকাপুর পোড়াকোট গ্রামের আনছারুল জানান,হামার বাপ-দাদার জমি জমা নদী ভাঙ্গনে বিলিন হয়ে গেছে, সেই নদীর তলায় ইরি-বোরো ধান চাষাবাদ করে বছরে প্রায় ৫/৬মাসের খাবারের সংস্থান হয়। সদর ইউপি'র যদুমণি গ্রামের দিনমজুর  উকিল জানান,আমার কোন চাষাবাদ যোগ্য জমি জমা নেই এই নদীর তলায় বোরো ধান চাষ করে কয়েক মাসের খাবারে সঞ্চয় হয়। এই ধান চাষে বাড়তি কোন সেচ ও কোন পরিচর্যা করতে হয়না আর ফলনও ভালো হয়। এব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার হাবিবুর রহমান জানান লক্ষ্যমাত্রার বাইরে কয়েক হেক্টর নদী তলায় ইরি বোরো ধান চাষাবাদ করে ভূমিহীন পরিবার বাচার স্বপ্ন দেখছেন।

মোংলায় ওঝা সেজে বাড়ীর লোকজনকে চেতনানাশক খাইয়ে নগদ টাকা, মোবাইল ও স্বর্ণালংকারসহ মালামাল লুট

মোংলায় ওঝা সেজে বাড়ীর লোকজনকে চেতনানাশক খাইয়ে নগদ টাকা, মোবাইল ও স্বর্ণালংকারসহ মালামাল লুট

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃমোংলায় ওঝা (কবিরাজ) সেজে বাড়ী বন্ধ ও ঝাড়-ফুকের নাম করে দুধের সাথে চেতনানাশক খাইয়ে বাড়ীর লোকজনকে অজ্ঞান করে নগদ টাকা, মোবাইল ফোন, স্বণার্লংকারসহ অন্যান্য মালামাল লুটে নিয়েছে দুই দুর্বৃত্ত।

 রবিবার রাতে মোংলার সাতঘরিয়া গ্রামের মৃত বিদ্যুতের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। পরে সোমবার সকালে ওই বাড়ীর তিন ব্যক্তিকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে প্রতিবেশীরা। 

স্থানীয়রা ও অজ্ঞানের শিকার পরিবারের স্বজনেরা জানান, রবিবার রাত ১০টার দিকে দুই ব্যক্তি সাতঘরিয়া গ্রামের বিদ্যুতের বাড়ীতে যান। তারা দুইজন ওই বাড়ীতে রাত কাটানোর জন্য বাড়ীর লোকজনকে বললে যাতে রাজি হয়ে তাদের রাতের খাবার খেতে দেন। এরপর তারা বাড়ীর লোকজনকে বলে এ বাড়ীতে ভয়ভীতির আচর রয়েছে তাই বাড়ী বন্ধ করতে হবে। ওই দুইজনের কথা মত সবকিছুই করেন বাড়ীর লোকজনেরা। কৌশলে এক পযার্য়ে তারা রাত ১২টার দিকে দুধের সাথে চেতনানাশক খাইয়ে দেন বাড়ীর গৃহকর্ত্রী  কবিতা, কবিতার ছেলে বিপ্লব ও কবিতার বড় বোন সবিতাকে। এরপর তারাও ঘরের বারান্দায় ঘুমানোর ভান করেন। দুধে মিশানো চেতনানাশক খেয়ে বাড়ীর লোকজন অজ্ঞান হয়ে পড়লে ঘরে ঢুকে ৯ থেকে ১০ হাজার নগদ টাকা, দুইটি মোবাইল ফোন ও স্বণার্লংকারসহ মালামাল নিয়ে যান। তবে স্বণার্লংকার ও অন্যান্য মালামালের সঠিক বিবরণ/পরিমাণ পাওয়া যায়নি। সোমবার সকালে ওই বাড়ীর লোকজনকে দেখতে না পেয়ে প্রতিবেশীরা সেখানে গিয়ে দেখেন ঘরে তিনজন অজ্ঞান হয়ে পড়ে রয়েছেন। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়েছে। হাসপাতালে নেয়ার পর দুপুরের দিকে তাদের সামান্য চেতনা ফিরেছে। তবে বেশি একটা কথা বলতে পারছেনা।

 হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা  ডা: জীবিতেষ বিশ্বাস বলেন, হাসপাতালে অজ্ঞান অবস্থায় আনা বিপ্লব (৩২), কবিতা মল্লিক (৫২) ও সবিতা মল্লিকের (৫৫) শারীরিক অবস্থা এখন ভাল এবং শংকামুক্ত।

কোটচাঁদপুর পৌর মেয়র ও কাউন্সিলরদের দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠান

কোটচাঁদপুর পৌর মেয়র ও কাউন্সিলরদের দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠান

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধান: ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের দায়িত্ব গ্রহণ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। 
সোমবার (১লা মার্চ)সকাল ১১ টায় 
পৌরসভা কতৃক আয়োজিত দ্বায়িত্ব গ্রহন ও দোয়া অনুষ্ঠানে পৌর সচিব মিঠু রহমানের সভাপতিত্বে ও কর আদায়কারি সেকেন্দার আলীর পরিচালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নবনির্বাচিত পৌর মেয়র সহিদুজ্জামান সেলিম। 
দুপুর ১১টায় নবনির্বাচিত মেয়র সহিদুজ্জামান সেলিম পৌরসভায় আসেন। এ সময় রাস্তায় দাঁড়িয়ে সমর্থকেরা তাঁকে ফুল ছিটিয়ে শুভেচ্ছা জানান। পৌরসভা প্রাঙ্গণে তাঁকে লালগালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়।
 এসময় উপস্থিত ছিলেন ১নং-ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাহাবুব খান হানিফ, ২নং-ওয়ার্ডের আব্দুল মাজেদ,৩নং-ওয়ার্ডের জাহিদ হোসেন, ৪নং-ওয়ার্ডের সুব্রত চক্রবর্তী,৫নং-ওয়ার্ডের শেখ সোহেল আরমান, ৬নং-ওয়ার্ডের শরিফুল ইসলাম,৭নং- ওয়ার্ডের খাইরুল ইসলাম, ৮নং-ওয়ার্ডের সোহেল আল মামুন, ৯নং-ওয়ার্ডের রকিব উদ্দিন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ১নং-(১,২,৩)-সংরক্ষিত ওয়ার্ডের রত্না পারভিন, ২নং-(৪,৫,৬)-ওয়ার্ডের গাজী তানজিমা এবং ৩নং-(৭,৮,৯)-ওয়ার্ডের শারমিন আক্তার সাথী সহ পৌরসভার সকল কর্মকর্তা কর্মচারী ও স্থানীয় সুধীজনরা।

নতুন মেয়র সহিদুজ্জামান সেলিম  বলেন,পৌরবাসীর সকল নাগরিক সেবা শতভাগ নিশ্চিত করতে সকলের সহযোগিতা নিয়ে পৌরবাসীর সেবা করতে চান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ

রাজশাহী ব্যুরোঃ শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। উন্নয়নের সবগুলো সুচক অর্জিত হওয়ার কারনে বাংলাদেশ ইতিমধ্যেই স্বল্প উন্নত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। পাকিস্তানের প্রচার মাধ্যমগুলোতে এখন গুরুত্বের সাথে প্রচার করা হচ্ছে, সবগুলো সুচকে পাকিস্তানকে পিছিয়ে ফেলে বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে। আমাদের মাথাপিছু আয় ভারতের মানুষের মাথাপিছু আয়কে ছাড়িয়ে গেছে। বিগত ১২ বছরে সকল ক্ষেত্রে বাংলাদেশের যত অর্জন হয়েছে তার সবগুলোর সাথে জড়িয়ে রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম। তথ্যমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি গতকাল রোববার দুপুরে নওগাঁর আত্রাই উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেছেন।
আত্রাই উপজেলা পরিষদ মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলালের সভপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন খাদ্যমন্ত্রী ও নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাধনচন্দ্র মজুমদার এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ রোকেয়া সুলতানা, নওগাঁ সদর আসনের এমপি ব্যারিষ্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জন এবং আত্রাই-রানীনগর আসনের এমপি আলহাজ আনোয়ার হোসেন হেলাল। সম্মেলন উদ্বোধন করেন নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল মালেক।
তথ্যমন্ত্রী আরও বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদুরপ্রসারী পরিকল্পনার ফলে বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি অনেক সহনীয় পর্যায় ছিল। পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশে বিপুল সংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত এবং মৃত্যুর ঘটনা ঘটলেও বাংলাদেশে তেমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় নি। বিএনপি নেতাসহ সরকারের সমালোচকরা করোনা শুরুর প্রথম থেকে বলে আসছে বাংলাদেশে কোটি কোটি মানুষ আাক্রান্ত হবে আর লক্ষ লক্ষ মানুষ মারা যাবে। তারা আরও বলেছিলেন সরকার করোনা প্রতিষেধক টিকা আনতেই পারবে না। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করা সম্ভব হয়েছে। টিকা উৎপন্ন হওয়ার আগেই টিকা ক্রয় করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। সেই টিকা বাংলাদেশে এসেছে এবং সাধারন মানুষের মধ্যে টিকা দেয়া অব্যাহত রয়েছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় যারা বলেছিলেন টিকা আনতে পারবে না সেই বিএনপি নেতারা এবং সামলোচকরা গোপনে টিকা গ্রহন করছেন। তিনি বিএনপি নেতা এবং ঐসব সমালোচকদের গোপনে টিকা গ্রহণ না করে প্রকাশ্যে টিকা নেয়ার আহবান জানান। তিনি এ ব্যপারে জনগণকে বিভ্রান্ত না করতে তাদের প্রতি আহবান জানান। করোনা পরিস্থিতিতে যখন শ্রমিক সংকটে কৃষকরা তাদের ক্ষেতের ফসল ঘরে তুলতে পারছিলনা তখন প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা মাঠে মাঠে গিয়ে কৃষকদের ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছে। দেশে এই ধরনের নজির ইতিপূর্বে ছিলনা।

মন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশ বর্তমানে ক্ষুধামুক্ত দেশ হিসেবে পরিচিত। এদেশে ভিক্ষুক খুঁজে পাওয়া যায় না। সরকার বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতা, অসহায় গৃহহীন পরিবারের মধ্যে ঘর বরাদ্দ দিয়ে দেশে নজির সৃষ্টি করেছেন। । মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক সন্মানীভাতা পর্যায়ক্রমে বৃদ্ধি করে এখন ২০ হাজার টাকা করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। সরকার সারাদেশে যত উন্নয়ন কার্যক্রম সম্পাদিত করেছে সেসব উন্নয়নের কথা দেশের মানুষের মধ্যে প্রচার করতে আওয়ামীলীগের সকল নেতাকর্মীদের আহবান জানান। সম্মেলনে নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগসহ বিভিন্ন অংগ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, আত্রাই উপজেলা আওয়ামীলীগ ও বিভিন্ন অংগ সংগঠন এবং উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের কাউন্সিলরবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্যায়ে নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলালকে সভাপতি ও মোঃ আক্কাছ আলীকে সাধারন সম্পাদক করে আত্রাই উপজেলা আওয়ামীলীগের আংশিক কমিটির নাম ঘোষনা করা হয়।

ইউএনও অনিমেষ বিশ্বাস বিশেষ সম্মাননায় ভূষিত

ইউএনও অনিমেষ বিশ্বাস বিশেষ সম্মাননায় ভূষিত

ফরহাদ হোসেন কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ
রাজস্ব প্রশাসনে সুশাসন নিশ্চিতকল্পে টেকসই ভূমি ব্যবস্থাপনা ও জনবান্ধন ডিজিটাল  ভূমি সেবা উদ্যোগের আওতায় 
" ডিজিটাল ভূমি-তথ্য ব্যাংক" সফলভাবে বাস্তবায়নে অসামান্য অবদান রাখায় কয়রা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার ( ভূমি) জনাব অনুমেষ বিশ্বাস বিশেষ সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন। গতকাল খুলনা জেলা প্রশাসন অডিটোরিয়ামে মাননীয় জেলা প্রশাসক, খুলনা জনাব মোহাম্মদ   হেলাল হোসেন   এই সম্মাননা স্মারক প্রদান করেন। খুলনা জেলা প্রশাসনের অভিনব উদ্ভাবনী উদ্যোগ  " ডিজিটাল ভূমি তথ্য ব্যাংক " বাংলাদেশে এই প্রথম। যার মাধ্যমে  খুলনা জেলার যত খাস জমি রয়েছে তাঁর তথ্য সংরক্ষণ করা যাবে। ভূমি  সংক্রান্ত ওয়েবসাইট ও মোবাইল অ্যাপ জনগণের ভূমি সেবা সহজে পেতে এক কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে, ভোগান্তি লাঘব হবে ও দুর্নীতিমুক্ত রাজস্ব প্রশাসন তৈরিতে সহায়তা করবে। ইতোমধ্যে টেকসই এই উদ্যোগটি বাংলাদেশে এই প্রথম উল্লেখ করে ভূমি মন্ত্রী জনাব সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেছেন,  "এই উদ্ভাবনী  উদ্যোগ অনুকরণযোগ্য, যার মাধ্যমে ভূমি সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিবে। খুলনা জেলা প্রশাসনের "ডিজিটাল ভূমি তথ্য ব্যাংক" উদ্যোগে অসামান্য অবদান রাখায়  কয়রা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব অনিমেষ বিশ্বাসকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।  কয়রাবাসী তাঁর এই অর্জনে সাধুবাদ জানিয়েছে।

নওগাঁর মান্দায় মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

নওগাঁর মান্দায় মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

মোঃ ফিরোজ হোসাইন, রাজশাহী ব্যুরোঃ নওগাঁর মান্দায় তিনতলা মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভার্চুয়ালে এ কাজের ফলক উন্মোচন করেন মুহা. ইমাজ উদ্দিন প্রামানিক এমপি। 
এ উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশন নওগাঁর উপপরিচালক কৃষিবিদ গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন মান্দা উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মোল্লা মোঃ এমদাদুল হক, গণপূর্ত বিভাগ নওগাঁর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আল মামুন হক, জমি মালিকগণের পক্ষে মুফতি  মাওলানা মোঃ মামুনুর রশিদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশন মান্দার সুপারভাইজার  মাওলানা মোঃ মাজেদুর রহমান, উপজেলা মডেল কেয়ার টেকার মোঃ আবুল কাসেম মৃধা প্রমুখ।
সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায়, তিনতলা বিশিষ্ট এ মসজিদে ইমাম প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, অটিজম কর্ণার জানাজা নামাজের ব্যবস্থা, ইসলামিক বই লাইব্রেরী, গাড়ি পার্কি ব্যবস্থা, ইসলামিক রিসোর্স সেন্টার, পুরুষ ও নারীর আলাদা নামাজ কক্ষসহ হেফজখানা থাকবে। মসজিদটি নির্মাণ করতে ব্যয় ধরা হয়েছে ১১ কোটি ৮৮ লাখ ৩৯ হাজার টাকা। ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও গণপূর্ত বিভাগ নওগাঁ কাজটি বাস্তবায়ন করছে।

ভোলায় হ্যাট্রিক মনিরের চরফ্যাশন বিজয় নৌকার, বিএনপির ভরাডুবি

ভোলায় হ্যাট্রিক মনিরের চরফ্যাশন বিজয় নৌকার, বিএনপির ভরাডুবি

মোঃ আওলাদ হোসাইন  :ভোলা সদর প্রতিনিধি,ভোলাঃ
কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোলা ও চরফ্যাশন পৌরসভায় ভোট গ্রহন শেষে হয়েছে। এই প্রথম ভোলার মানুষ এত চমৎকার ভোটের পরিবেশ পেয়ে খুবই আনন্দিত এবং শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন ভোলার এসপি ডিসি মহোদয়দেরকে।  কারন ভোটের আগে যদিও ভোলায় অনেক অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে তাই সাধারন ভোটাররা খুবই শংকিত ছিল কিন্তু ভোটারদের কেন্দ্র পৌছানোর দায়িত্ব লিলেন সরকার মোহাম্মদ কায়সার এসপি ও ডিসি মহোদয়। সার্বক্ষণিক মনিটরিং ও কড়া নিরাপত্তা এবং অতিরিক্ত পুলিশ, বিজিবি,র‍্যাব,আনসারসহ নির্বাচনী পরিবেশ সুষ্ঠ রাখার জন্য  জন্য নিয়োজিত ছিল। তবে ভোটার উপস্থিতি ছিল কম।
 ভোলা পৌরসভায় আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ মনিরুজ্জামন মনির ১৬ হাজার নিরানব্বই ভোট পেয়ে তৃতীয়বারের মত হ্যাট্রিক বিজয় লাভ করেছেন। অপর দিকে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হারুনুর রশীদ ট্রুম্যান ( ধানের শীষ) পেয়েছে ২ হাজার ৩৪, হাতপাখা পেয়েছে ১১শত আট।
 চরফ্যাশন পৌরসভায় আওয়ামীলীগের প্রার্থী (নৌকা) প্রতীকে  মোঃ মোরশেদ আলম ১৪ হাজার ৯১৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।
বিএনপি ৭শত ৪৭,জামায়াত মনোনীত নারিকেল পেয়েছে ৭শত ৮১ ভোট। বিএনপি'র ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত না থাকায় নির্বাচনে বিএনপি'র ভরাডুবি হয়েছে। শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহনে অভিনন্দনে আর প্রশাসংশায় ভাসছে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক ও পুলিশ সুপার সরকার মোঃ কায়সার।

ভোলা পৌরসভায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন ১নং ওয়ার্ডে মোঃ মঞ্জুরুল আলম,(ডালিম) ২নং ওয়ার্ডে মোঃ মিজানুর রহমান (উটপাখি), ৩নং ওয়ার্ডে ছালাহ উদ্দিন লিংকন (উটপাখি), ৪নং ওয়ার্ডে মোঃ আসাদ হোসেন জুম্মান (উটপাখি), ৫নং ওয়ার্ডে মোঃ এরফানুর রহমান মিথুন মোল্লা (ডালিম), ৬নং ওয়ার্ডে মোঃ ওমর ফারুক (ডালিম), ৭নং ওয়ার্ডে মোঃ শাহে আলম (উটপাখি), ৮নং ওয়ার্ডে মোঃ নাছির উদ্দিন হেলাল (পাঞ্জাবি), ৯নং ওয়ার্ডে মোঃ মাঈনুল ইসলাম শামীম (উটপাখি)। সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন ১,২,৩ নং ওয়ার্ডে জোছনা ইয়াছমিন (আনারস), ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডে সামসুন নাহার সোনিয়া (চশমা), ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডে রাজিয়া সুলতানা (অটোরিক্সা)। সকাল ৮টটা থেকে প্রশাসনের কড়া নজরদারীর মধ্যে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহন শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট চলে। এদিকে সকল ধরনের পরিবেশ রিরাজমান থাকার পরও বিএনপি মনোনীত প্রার্থীদের পক্ষের ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে ভোট প্রদানে অংশ গ্রহন না করায় বিএনপি'র ভরাডুবি হয়েছে বলে দাবী বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের। শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিকি ও পুলিশ সুপার সরকার মোঃ কায়সারকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন সুশীলসমাজসহ সর্বস্তরের মানুষ। চরফ্যাশন পৌরসভায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন নং ওয়ার্ডে স্বপন চৌধুুরী, ২নং ওয়ার্ডে মোঃ মফিজ, ৩নং ওয়ার্ডে আবদুল মতিন মোল্লা, ৪নং ওয়ার্ডে আকতারুল আলম সামু, ৫নং ওয়ার্ডে গিয়াস উদ্দিন, ৬নং ওয়ার্ডে মনির হোসেন, ৭নং ওয়াার্ডে মোস্তাহিদুল হক তানভীর, ৮নং ওয়ার্ডে ছিদ্দিকুর রহমান মোক্তাদি, ৯নং ওয়ার্ডে মিজানুর রহমান মঞ্জু।

বেপারীপাড়া কবরস্থান ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে তাফসিরুল কুরআন মাহফিল অনুষ্ঠিত

বেপারীপাড়া কবরস্থান ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে তাফসিরুল কুরআন মাহফিল অনুষ্ঠিত

হাসান সাদী,নাগরপুর প্রতিনিধি:নাগরপুরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্হিত  ঐতিহ্যবাহী বাবনাপাড়া(বেপারীপাড়া) কবরস্থান ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে অত্র এলাকার জামে মসজিদের সম্মানিত সাধারন সম্পাদক মো.জাকির হোসেন এর সভাপতিত্বে তাফসিরুল কুরআন মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

আজ রবিবার,২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রি.বাদ আছর হইতে অত্র এলাকার কবরস্থান মাঠে তাফসিরুল কুরআন মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।প্রধান মেহমান হিসাবে তাফসির পেশ করেন, বিশিষ্ট ইসলামিক চিন্তাবিদ ও জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত ইসলামিক সংগিত শিল্পী হযরত মাওলানা এফ.এম.জাহাংগীর আলম (মাগুরা)।

বিশেষ মেহমান হিসাবে তাফসির পেশ করেন-বিশিষ্ট ইসলামিক চিন্তাবিদ ও মোফাচ্ছিরে কুরআন হাফেজ  মাওলানা মো.আসলাম উদ্দীন জিহাদী(কুষ্টিয়া)।বাবনাপাড়া এম সি সি দাখিল মাদ্রাসার সহকারি সুপার হযরত মাও.এস.এম মঈন উদ্দীন(মঈনুল)   ।

 জিকির পরিচালনা করেন-শরিষাজানী আলীম মাদ্রাসার সহকারি শিক্ষক হযরত মাও.মো.শামসুল হক জিহাদী।তাফসিরুল কুরআন মাহফিল পরিচালনা করেন-মাও.মুফতী শহীদুল ইসলাম সিরাজী।
হাফেজ মো.অজিম উদ্দীন।

 তাফসিরুল কুরআন মাহফিলে উপস্হিতি ছিলেন স্হানীয় ওলামা কেরামগণ সহ নাগরপুরের সর্বস্বরের ইসলাম প্রিয় তৌহিদী মুসলমানবৃন্দ।