সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-১

সড়ক দুর্ঘটনায়  নিহত-১




মোরশেদ আলম,যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধিঃযশোর নড়াইল সড়কের হামকুড়ো ব্রীজ এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় শাকিল হোসেন (২৩) নামে এক ঔষধ কোম্পানির স্টাফ নিহত হয়েছে৷ বুধবার সন্ধা ৬ টার দিকে এদুঘটনা ঘটে৷ নিহত শাকিল সদর উপজেলার চাঁদপাড়া গ্রামের সেলিম হোসেনের ছেলে৷ তিনি ইতিক্যাল ড্রাগস কোম্পানি লিমিটেড এর যশোর এরিয়ার স্টাফ৷

নিহতের প্রতিবেশি দাদা আলমগীর সিদ্দিক জানান, বুধবার সন্ধার দিকে বাড়ি থেকে মটরসাইকেল যোগে ফতেপুর যাচ্ছিলো৷ পথিমধ্যে যশোর নড়াইল সড়কের হামকুড়ো ব্রীজ এলাকায় পৌছালে অঙ্গাত নামা গাড়ীতে দূরঘটনার শিকার হয়৷ খবর পেয়ে স্থানিয়রা ও পুলিশ এসে নিহত শাকিলকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে৷ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক অমিও দাস সন্ধা ৭টার দিকে মৃৃৃৃত ঘোষনা করে মর্গে পাঠান৷ তিনি বলেন হাসপাতালে আনার আগে তার মৃৃৃৃত্যু হয়েছে৷কোতয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) ওহেদুজ্জামান বলেন খবর পেয়ে ঘটনা স্থালে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসি৷

হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে কুলাউড়ায় বিক্ষোভ মিছিল

হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে কুলাউড়ায় বিক্ষোভ মিছিল


মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় মদদে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে রাউৎগাঁও বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশের আয়োজন করে মুকুন্দপুর এলাকাবাসী।৪ নভেম্বর বুধবার বিকালে মিছিলটি কুলাউড়া উপজেলার মুকুন্দপুর জামে মসজিদের সম্মুখ থেকে শুরু হয়ে স্থানীয় চৌধুরী বাজার চৌমুহীনিতে এক সমাবেশে মিলিত হয়।

সমাবেশে রাউৎগাঁও ইউপি তালামীযের সাবেক সভাপতি আব্দুল আজিজ শামিমের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন কুলাউড়া উপজেলার পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মাওলানা ফজলুল হক খান সাহেদ, সাবেক রাউৎগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান এস এম জামান মতিন,বাবনিয়া হাসিমপুর নিজামিয়া আলিম মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আহসান উদ্দিন,রাউৎগাঁও ইউপি সদস্য নোমান আহমদ,তরুন ব্যবসায়ী লিটন হুসাইন, রিপন হুসাইন, রাসেল হুসাইন,আব্দুল কাইয়ূম সহ এলাকার ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা ।সমাবেশে বক্তরা বলেন, ফ্রান্স রাষ্ট্রীয় ভাবে বিশ্বনবী হযরত মুহম্মদ (সা.) কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র করে যে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে তা সারা বিশ্বের মুসলমানের অন্তরে কুঠারাঘাত করেছে। পাশাপাশি ফান্সের সকল ধরণের পণ্য বর্জনের আহবান জানান।

ফ্রান্স কর্তৃক বিশ্বনবী কে, অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

ফ্রান্স কর্তৃক বিশ্বনবী কে, অবমাননার প্রতিবাদে  বিক্ষোভ

আব্দুর রাজ্জাক, হরিরামপুর(মানিকগঞ্জ)  প্রতিনিধি অদ্য ০৪/১১/২০২০ মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর উপজেলা ইমাম পরিষদের উদ্যোগে, ফ্রান্স কর্তৃক বিশ্বনবী কে, অবমাননার প্রতিবাদে সকাল ১০ ঘটিকায় উপজেলা চত্বরে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।  উক্ত বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আল্লামা জুনায়েদ আল হাবীব।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী, আল্লাম মুফতি সাঈদ নুর,মুফতী  আব্দুল বাতেন। উক্ত বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন হাফেজ জয়নুল আবেদীন। এছাড়া আরো বক্তব্য পেশ করেন মুফতি মিজানুর রহমান মাওলানা আব্দুল্লাহ ফিরোজ, মাওলানা আশরাফুল ইসলাম, মুফতি আব্দুল্লাহ, বিক্ষোভ মিছিল পরিচালনা করেন মাওলনা মাসুদুর রহমান আইয়ুবী, মাওলনা আব্দুল আউয়াল অরঙ্গবাদী।বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা দোয়ার মাধ্যমে সমাপ্ত হয়।

আওয়ামী লীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আখতারুজ্জামান চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী

আওয়ামী লীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আখতারুজ্জামান চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী

 


শিপন নাথ,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:- মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বর্ষীয়ান রাজনীতিক, আওয়ামী লীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আনোয়ারার হাইলধরে মরহুমের গ্রামের বাড়িতে পরিবারের পক্ষ থেকে খতমে কোরআন, মিলাদ মাহফিল ও কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণসহ নানা কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। মরহুমের জৈষ্ঠ পুত্র ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপি ও মরহুমের পরিবারের সদস্যরা এতে উপস্থিত থাকবেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব রিদুয়ানুল করিম চৌধুরী সায়েম। এছাড়া আনোয়ারা উপজেলা পরিষদ, উপজেলা আওয়ামী লীগ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, শ্রমিকলীগ, স্বেচ্চাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ, অঙ্গসংগঠনসহ বিভিন্ন সামাজিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে পৃথক পৃথক কর্মসূচি পালিত হয়।


আনোয়ারা-কর্ণফুলীবাসীর সুখ-দুঃখের সাথী ছিলেন আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ, ১৯৯১ সালে প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড় কিংবা যেকোনো দুর্যোগ-দুর্বিপাকে এলাকাবাসীর জন্য সবসময় ছায়া হিসাবে ছিলেন তিনি। নেতৃত্ব, জনপ্রিয়তা আর কর্মগুণে নিজের নামের চেয়ে বাবু মিয়া নামেই বেশি পরিচিতি পেয়েছিলেন এলাকাবাসীর কাছে।

২০১২ সালের ৪ নভেম্বর বর্ষীয়ান এই রাজনীতিক ইন্তেকাল করেন। তাঁর মৃত্যুর পর ছেলে সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ একই আসন থেকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে এমপি নির্বাচিত হন। বর্তমানে তিনি সরকারের সফল ভূমিমন্ত্রী হিসেবে সারাদেশে প্রসংশিত হয়েছেন। মেজ ছেলে আনিসুজ্জামান চৌধুরী রনি দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক এবং বেসরকারি ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের (ইউসিবি) চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। আর ছোট ছেলে আসিফুজ্জামান চৌধুরী জিমিও একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী।

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নিবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নিবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

জবি প্রতিনিধি:জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) এর ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক ভর্তি পরীক্ষা সমন্বিত অর্থাৎ গুচ্ছ পদ্ধতিতে নেবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। মহামারী করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ এড়াতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সরকার যে সমন্বিত বা গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার কথা ভাবছে, সে পদ্ধতিই অনুসরণ করবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।

বুধবার (৫ নভেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান এ তথ্য জানান। বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমি কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইউজিসি ও সরকারগৃহিত এ পদ্ধতিতে স্নাতক পরীক্ষা নিবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, “আমরা গুচ্ছ পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেব।” সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত উপাচার্যদের কমিটির এই সদস্যের মতে, সব বিশ্ববিদ্যালয় সমন্বিতভাবে পরীক্ষা নিলে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমে আসবে।

“ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগীয় শহরে পরীক্ষার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এটা ইতিবাচক। যেহেতু এ বছর বিশেষ একটা পরিস্থিতি, সেজন্য যানজট ও পরিবহনের চিন্তা করে ঢাবির পরীক্ষা বাংলাদেশের সব জায়গায় হবে। অতএব পরীক্ষাটা সম্মিলিতভাবে সবাই একদিনে নিয়ে নিলেই তো হয়ে যায়।”উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান আরও বলেন, “আমাদের সবগুলো বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগীয় সদরেই আছে। ঢাবির সিদ্ধান্ত যদি সবাই মেনে নিই, সব শহরে একদিনে পরীক্ষা হবে; এ পরীক্ষার ফলাফলই সবাই গ্রহণ করবে, তাহলেই তো ঘটনাটা শেষ হয়ে যায়।”

উপদেষ্টা পরিষদ ও এডমিন প্যানেল প্রকাশ

 উপদেষ্টা পরিষদ ও এডমিন প্যানেল প্রকাশ


মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়ার অন্যতম জনপ্রিয় অনলাইন টিভি  চ্যানেল অনুলিপি কুলাউড়া'র ২৫ হাজার লাইক পূর্তি হওয়ার পরপরই গঠন করা হলো উপদেষ্টা পরিষদ ও এডমিন প্যানেল। জানা যায়,গত ১লা নভেম্বর অনুলিপি কুলাউড়ার প্রতিষ্ঠাতা আশিকুল ইসলাম বাবু এর সঞ্চালনায় প্রস্তাবিত উপদেষ্টা সদস্য ও এডমিন সদস্যদের নিয়ে অনলাইনে একটি ভার্চুয়াল আলোচনার আয়োজন করা হয়।আলোচনায় অংশগ্রহণ গ্রহণ করা সকলের সম্মতিক্রমে ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি উপদেষ্টা পরিষদ এবং ৮ সদস্য বিশিষ্ট একটি এডমিন প্যানেল করে মোট ১৩ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদ ও এডমিন প্যানেল গঠন করা হয়।

উপদেষ্টা পরিষদে স্থান পেয়েছেন ইতালি প্রবাসী নাজমুল হোসাইন, কাতার প্রবাসী ছালেহ আহমেদ, সাংবাদিক এ কে এম জাবের, সাংবাদিক শরীফ আহমেদ, ফ্রান্স প্রবাসী ফয়েজ আহমদ তপন। এবং এডমিন প্যানেলে রয়েছেন অনুলিপি কুলাউড়ার প্রতিষ্ঠাতা আশিকুল ইসলাম বাবু, সহ প্রতিষ্ঠাতা মোয়াজ চৌধুরী, সিনিয়র এডমিন সৈয়দা হাবিবা ইসলাম ইমা, খালেদুর রহমান তানজুল, আজহার মুনিম শাফিন, এডমিন জান্নাতুল ফেরদৌস সাকি, সানজিনা বিন ইসলাম, সাইদুর রহমান। 

আরো জানা যায়,  অনুলিপি কুলাউড়া ২০১৮ সালের ১লা জানুয়ারি যাত্রা শুরু করে খুব অল্প সময়েই তারা তাদের ফেইসবুক পেইজে ২৫ হাজার লাইক অর্জন করতে সক্ষম হয় এবং লক্ষ্য করা যায় বর্তমানে তাদের পেইজে প্রকাশিত কুলাউড়ার চলমান ঘটনা সমূহের সংবাদে মানুষের লাইক কমেন্ট শেয়ারের সংখ্যাও অনেকটা চোখে পড়ার মতো।

এক প্রতিক্রিয়ায় জানতে চাইলে অনুলিপি কুলাউড়ার প্রতিষ্ঠাতা আশিকুল ইসলাম বাবু জানান- মফস্বল শহর কুলাউড়ার সাংবাদিক  অঙ্গনে প্রত্যেক সংবাদ মাধ্যমের কাজ অনেক প্রশংসনীয়, কুলাউড়ার সম্মানিত অনেক ব্যক্তি সাংবাদিকতায় কাজ করায় কুলাউড়াবাসি সহজেই নিজ শহর কুলাউড়া ও দেশ এবং বিদেশের সংবাদ সমূহ মুহুর্তেই জানার সুযোগ পাচ্ছে। আমাদের ইচ্ছে ছিলো কুলাউড়ায় এমন একটা সংবাদ মাধ্যম তৈরি করার যেখানে শুধুমাত্র কুলাউড়ার সংবাদ ও তথ্য প্রকাশ হবে সেই লক্ষ্য নিয়ে অনুলিপি কুলাউড়ার যাত্রা শুরু হয় এবং আমরা সেই লক্ষ্যেই স্থির থেকেই কাজ করে যাচ্ছি। যার ফল স্বরুপ আমরা পেয়েছি কুলাউড়াবাসির ব্যাপক সাড়া এবং ভালোবাসা।

এছাড়াও অনুলিপি কুলাউড়ার নবগঠিত উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য নাজমুল হোসাইন জানান,কুলাউড়া আমার প্রাণের শহর, দীর্ঘদিন ধরে প্রবাসে অবস্থান করায় আপন শহর কুলাউড়ার বিভিন্ন সংবাদ বা ঘটনা সহজেই জানতে পারি অনুলিপি কুলাউড়া ফেইসবুক পেইজ থেকে৷ গত কয়েকদিন আগে অনুলিপি কুলাউড়ার এডমিন প্যানেল আমার সাথে যোগাযোগ করে আমাকে সহ প্রস্তাবিত উপদেষ্টা পরিষদ সদস্যদের নাম জানানো হয়। যাদের নামই প্রস্তাব করা হয় সকলেই কুলাউড়ার জন্য  বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। সকলের একত্রিত প্রচেষ্টায় অনুলিপি কুলাউড়া আরো এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে তাদের সাথে আমাদের যাত্রা শুরু, আশা করি এখন পূর্বের চেয়ে কুলাউড়াবাসি অনুলিপি কুলাউড়া থেকে আরো ভালো কিছু কাজ উপহার পাবে।

অটোরিকশা ও ইজিবাইক চালকদের সংঘর্ষে আহত ৫,

অটোরিকশা ও ইজিবাইক চালকদের সংঘর্ষে আহত ৫,


মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃমৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলা শহরে সিএনজি চালিত অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক চালকদের মধ্যে সংঘটিত সংঘর্ষে উভয় পক্ষে ৫ জন আহতসহ গাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।

৪ নভেম্বর বুধবার সকাল ১০ টা থেকে বিকেল পর্যন্ত দফায় দফায় লাঠিসোটা নিয়ে সংঘর্ষ চলাকালে শহরে মধ্যে  আতংক ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় শহরের অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়। শহরের পথচারীরা আত্মরক্ষার্থে দিকবিদিক ছুটাছুটি শুরু করেন।

জানা যায়, কুলাউড়া শহরে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক রিকশা চলাচল বন্ধ করা নিয়ে ইজিবাইক রিকশা চালকদের সাথে সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালকদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে ৫ জন আহত ছাড়াও মারমুখী শ্রমিকরা ব্যাপক সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ভাংচুর করে ক্ষয়ক্ষতি সাধিত করে।এ ঘটনায় আহত ৫ জনকে কুলাউড়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে ১ জনকে ভর্তি করা হয় ও ৪ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য উপজেলা চেয়ারম্যান একে এম সফি আহমদ সলমান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম, কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাদেক কাওসার দস্তগীর এবং কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসানসহ একদল পুলিশ দীর্ঘসময় প্রচেষ্টা চালিয়ে মারমুখী উভয়পক্ষকে নিয়ন্ত্রণ করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন।কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে এবং শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

লাকসামে চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ রোধে সভা

লাকসামে চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ রোধে সভা



মোঃ রবিউল হোসাইন সবুজ, লাকসাম(কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃচলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ, সিগন্যাল তার কর্তন এবং লেভেল ক্রসিং পারাপার প্রতিরোধ সংক্রান্তে বিষয়ে কুমিল্লা লাকসাম জনসচেতনতামূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 আজ বুধবার (৪রা নভেম্বর) বিকেলে লাকসাম রেলওয়ে থানার আয়োজনে পৌর-শহরের গন্ডামারা এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের হিসাবে, গত পাঁচ বছরে ট্রেনে পাথর ছুড়ে ২,০০০ বেশি জানালা-দরজা ভাঙ্গার ঘটনা ঘটেছে।

লাকসাম পৌরসভার প্যানেল মেয়র বাহাউদ্দিন বাহারের সভাপতিত্বে সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নাজিম উদ্দিন বলেন, চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ, সিগন্যাল তার কর্তন এবং লেভেল ক্রসিং পারাপার বিষয়ে আমরা সবাই বিরত ও সচেতন থাকব। যারা এই কাজটি করে তাদের কে আইনের আওতায় আনার জন্য পুলিশ কে সহযোগিতা করবেন।এ মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন প্রধান অতিথি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট মোঃ ইউনুছ ভূইয়া বলেন,দুষ্কৃতকারীরা চলন্ত ট্রেনে ঢিল মেরে নিরাপদ বাহনকে অনিরাপদ করে তুলছে। যাতে ট্রেনের যেমন ক্ষতি হচ্ছে, তেমনি মানুষের জীবনও বিপন্ন হচ্ছে।এ ধরণের অপরাধীকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে হস্তান্তরের জন্য তিনি আহবান জানিয়েছেন।বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রেলওয়ে চট্টগ্রাম রেঞ্জের সহকারি পুলিশ মোঃ কামরুল হাসান, লাকসাম উপজেলা পরিষদের সম্মানিত ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ মহব্বব আলী। লাকসাম প্রেসক্লাবের সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম হিরা।পৌর কাউন্সিলর  আফতাব উল্লাহ চৌধুরি ঝন্টু, মোঃ খলিলুর রহমান, সাংবাদিক নাসির উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন,  স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ এলাকার শত শত নারী-পুরুষ।

লোহাগড়ায় পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান উদ্বোধন

 লোহাগড়ায় পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান উদ্বোধন

মো: আজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার।।আজ ৪/১১/২০২০ তারিখ :বুধবার সকাল দশটায় ওয়েসিস ইয়ুথ নামক একটি সামাজিক যুব সংগঠন এর আয়োজনে এবং নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ বাস্তবায়ন পরিষদের সহযোগিতায় লোহাগড়া মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স চত্বরে এই কায্যক্রমের উদ্বোধন করেন।  সাবেক মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হামিদ,সভায় বক্তব্য রাখেন শিক্ষক এস এম হায়াতুজ্জামান, নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ বাস্তবায়ন পরিষদ (নিসরাপ) এর চেয়ারম্যান সৈয়দ খায়রুল আলম, মোওলানা মোঃ হেদায়েতুল্লাহ্, প্রমুখ। 

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সংগঠনের ফাউন্ডার মো. ইকরামুল ইসলাম।এ সময়ে উপস্হিত ছিল সংগঠনের সদস্য সাব্বির রায়হান, সাকিব হাসান, তানিশা ইসলাম মিম, সুমাইুয়া আফরিন শ্যামা,মোঃ হৃদয় মোল্যা,তানবীর শিকদার,সিফাত মঞ্জুর স্বপ্নীল,এস.এম. আর্শীনুল বাহার,ফাহিমুর রহমান সোহান,মোঃ মিরাজুল ইসলাম, ঐশী ইসলাম, মাওলানা মোঃ হেদায়েতুল্লাহ্, এম শাহরুখ কবীর সিফাত।

উদ্বোধনী আলোচনা শেষে এই পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান লোহাগড়া মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স চত্বর থেকে শুরু করে প্রেসক্লাব, লোহাগড়া বাজার,বাজার সংলগ্ন ব্রীজ ও সিএন্ড বি ব্রীজ সহ অন্যান্য স্থান পরিস্কার করেন আজ। পরবর্তিতে অন্যান্য এলাকায় এ কাজ করে যাবে বলে জানান সংগঠনের  ফাউন্ডার মো. ইকরামুল ইসলাম ও অন্য সদস্যরা।নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ বাস্তবায়ন পরিষদ (নিসরাপ) এর চেয়ারম্যান সৈয়দ খায়রুল আলম বলেন, করোনার এই সেকেন্ড ওয়েভ মোকাবেলা করতে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার বিকল্প নাই।এভাবে সকল সংগঠনকে এগিয়ে আসতে হবে,সরকারের পাশাপশি বেমরকারি সংগঠন এভাবে সমাজের জন্য এগিয়ে আসলে যেকোন মহমারি মোকাবেলা সম্ভব বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। তিনি  পথেঘাঠে পথচারিদের মাক্স সহ সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

ঝিনাইদহ- কুষ্টিয়া মহাসড়ক পাথরের পরিবর্তে ইটের খোয়া দিয়ে কাজ চলছে

 ঝিনাইদহ- কুষ্টিয়া মহাসড়ক পাথরের পরিবর্তে ইটের খোয়া দিয়ে কাজ চলছে



সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃপাথরের পরিবর্তে ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহাসড়কের শৈলকুপা অংশ হচ্ছে ইটের খোয়া দিয়ে৭ মাস পর সংস্কার কাজে ফিরে নিয়ম না থাকলেও পাথরের পরিবর্তে ইটের খোয়া দিয়ে মহাসড়ক সংস্কার করছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। ঘটনাটি ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহসড়কের ঝিনাইদহের শৈলকুপার ভাটই বাজার এলাকায়। মহাসড়ক সংস্কারে পাথরের পরিবর্তে ইটের খোয়া দেওয়ার কোন নিয়ম নেই । তবে ঠিকাদরী প্রতিষ্ঠানের সাথে কথা বলে জানা যায়, বড় গর্ত সংস্কারে তাদের কোন অর্থ বরাদ্দ না থাকায় তারা ঝিনাইদহ সড়ক বিভাগের অনুমোতি নিয়ে খোয়া দিয়ে এ কাজ করছেন। এদিকে ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহাসড়কের শৈলকুপা অংশে দায়িত্বে থাকা সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তা বলেন তারা এ ধরনের কোন অনুমোতি দেননি বরং ঐ অংশের কাজ তিনি বন্ধ করতে বলেছেন। এলাকাবাসীর অভিযোগ, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান উপরে ফিটফাট ভিতরে সদরঘাট কায়দায়  সংস্কার করছে। যা দুই তিন মাসের মধ্যে এ মহাসড়কটি ফিরবে আবার আগের অবস্থায়।খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহাসড়কের ঝিনাইদহ থেকে শৈলকুপার শেষ অংশ ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় পর্যন্ত ২০ কোটি টাকার সংস্কার কার্যাদেশ পায় ঢাকা ভিত্তিক আবেদ মনসুর কনস্ট্রাকশন ফার্ম। চলতি বছরের গত জানুয়ারী থেকে তারা এ মহাসড়কের সংস্কার কাজ শুরু করার পর থেকে অনিয়মের অভিযোগে কয়েকবার মানববন্ধন করে এলাকাবাসি। এরপর সংস্কারের মাঝ পথে মার্চ মাসে করোনাকালীন সময়ে কাজ বন্ধ করে চলে যায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘ ৭ মাস সংস্কারের কাজ বন্ধ থাকার পর সড়ক বিভাগের একের পর এক চিঠির পর গত মাসে সড়ক সংস্কারের ফেরে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

পাথরের পরিবর্তে ইটের খোয়া দিয়ে কাজ করা অংশের ভাটই বাজারের স্থানীয় ব্যবসায়ী ইমরান এন্টারপ্রাইজের ইমরান হোসেন বলেন, প্রথমে যখন মহাসড়ক সংস্কারের আসে এ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান তখন থেকেই ভোগান্তি। ৭ মাস কাজ বন্ধ থাকার পর আবার সংস্কার কাজ শুরু করে তারা। এবার পাথরের পরিবর্তে ইটের খোয়া দিয়ে সংস্কার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে । এটা দেখার কেউ নেই। তারা গভীর রাতে কাজ করে যখন সরকারের কোন দায়িত্বশীল ব্যক্তি এখানে থাকে না। ২/৩ মাসের মধ্যে খুলনা-ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়ার এই মহাসড়ক আবার চলাচলের অনুপযোগী হবে বলে তিনি জানান।শৈলকুপার ভাটই এলাকার নাকোল গ্রামের তরিকুল ইসলাম বলেন, ২০ কোটি টাকার মহাসড়ক সংস্কার যদি পাথরের পরিবর্তে ইটের খোয়া দিয়ে হয় আর এটা দেখার কেউ না থাকে তা হলে এর থেকে দু:খজনক ঘটনা আর কি হতে পারে? শৈলকুপার ভাটই বাজারের ব্যবসায়ী স্বপন কর্মকার বলেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান যে ভাবে কাজ করছে আপনি দেখলে বুঝতে পারবেন না যে কি পরিমান অনিয়ম করছে। এ যেন উপরে ফিঠফাট ভিতরে সদরঘাট।ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহাসড়কের সংস্কার কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রজেক্ট ম্যানেজার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, বড় বড় গর্ত সংস্কারে তাদের কোন অর্থ বরাদ্দ নেই এ কারণে তারা গর্তে ইটের খোয়া দিয়ে তার উপর পাথর দিচ্ছেন। আর এ কাজটি তারা ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের অনুমতি নিয়েই করছেন। ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহাসড়কের সংস্কার কাজের শৈলকুপা অংশের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আলহাজ গোলাম সরোয়ার জানান, মহাসড়ক সংস্কারে পাথরের পরিবর্তে ইটের খোয়া দেওয়ার কোন বিধান নেই। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে ইটের খোয়া দিয়ে সড়ক সংস্কারের অনুমতি দেওয়া হয়েছে তাদের এ কথা ঠিক না। বরং যে স্থানে তারা এ কাজ করছে সেখানে কাজ বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি বলে জানান।

যশোরের হালসা থেকে বাইক, টাকা ও মোবাইল ছিনতাই

 যশোরের হালসা থেকে বাইক, টাকা ও মোবাইল ছিনতাই



যশোর জেলা প্রতিনিধিঃশত্রুতার জের ধরে সদর উপজেলার হালসা এলাকায় চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে মারপিট ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। এ ঘটনায় তিন জন নামসহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫জনের নামে মামলা করেন। মামলায় আসামীরা হচ্ছে, ওই গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে কামরুল,ঝিকরগাছা উপজেলার ঘোড়দাহ কামারডাঙ্গা গ্রামের মুরাদ আলীর ছেলে মোরছালিন ও হালসা গ্রামের ইকবালের ছেলে রুম্মানসহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫জন।

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার ঘোড়দাহ গ্রামের মটুক বিশ্বাসের স্ত্রী রুবিয়া বেগম বাদি হয়ে সোমবার ২ নভেম্বর রাতে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। মামলায় তিনি বলেছেন,কামরুলের বোনের সাথে রুবিয়া বেগমের ভাসুরের ২৩ বছর পূর্বে বিয়ে হয়। পরবর্তীতে ভাসুরের অসুস্থ্যতার কারনে তাদের মধ্যে তালাক হয়। এই বিষয় নিয়ে র্দীঘদিন তাদের মধ্যে পূর্ব শত্রুতা চলে আসছিল। গত ১ নভেম্বর রোববার বেলা সাড়ে ১১ টায় রুবিয়া বেগমের স্বামী মটুক বিশ্বাস ও তার ছোট ভাই রন্টু বিশ্বাসের স্ত্রী সালেহা মমতাজকে মোটর সাইকেল যোগে সাথে নিয়ে ডাক্তার দেখিয়ে বাড়িতে ফিরছিল। হালসা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে জামতলার মোড়ে পৌছালে উক্ত আসামীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র অবস্থায় মটুক মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে। মোটর সাইকেল থেকে নামিয়ে পাশের মেহেগুনি বাগানের কাছে নিয়ে গালিগালাজ করতে থাকে। মটুক বিশ্বাস  প্রতিবাদ জানালে কামরুলের হুকুমে মারপিট শুরু করে। চাইনিজ কুড়াল দিয়ে আঘাত করে এ সময় মটুক বিশ্বাসের  পকেটে থাকা নগদ ৫হাজার ৭শ’ টাকা ১২ হাজার টাকা মূল্যের টার্চ মোবাইল ফোন, বাজাজ মোটর সাইকেল যাহার নং (যশোর হ-১৪-১৫৫২) মোটর সাইকেল আসামীরা ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় ছোট ভাইয়ের স্ত্রী সালেহা মমতাজ চিৎকার দিলে লোকজন ঠেকাতে গেলে আসামীরা সালেহা মমতাজতে হত্যার হুমকী দিয়ে চলে যায়। মটুক বিশ্বাসকে  আহত অবস্থায় যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কোটচাঁদপুরে তরিকুল ইসলামের দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল

কোটচাঁদপুরে তরিকুল ইসলামের দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল

 





খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান। 



বুধবার  কোটচাঁদপুর  পৌর বিএনপির উদ্যোগে বিএনপির কার্যালয়ে বাদ মাগরীব যশোর উন্নয়নের কারিগর, সাবেক সফল মন্ত্রী, বষীয়ান রাজনীতিবিদ বিএনপি'র জাতীয় স্থায়ী কমিটির প্রয়াত সম্মানিত সদস্য, জননেতা তরিকুল ইসলামের ২য় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে প্রয়াত নেতার স্বরনে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে কোটচাঁদপুর পৌর বিএনপির সদস্য সচিব জনাব মোঃ ফারুক হোসেন খোকন এর সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপি আহ্বায়ক কমিটির সদস্য জনাব মোঃ আবু বক্কর বিশ্বাস, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপি আহ্বায়ক কমিটির সদস্য জনাব মোঃ ফারুকুল আলম শেখা, জনাব মোঃ আবুল কাশেম যুগ্ম আহ্বায়ক পৌর বিএনপি, জনাব মোঃ আব্দুল রশিদ সরদার যুগ্ম আহ্বায়ক পৌর বিএনপি, জনাব মোঃ রুস্তম কবির যুগ্ম আহ্বায়ক পৌর বিএনপি, জনাব  খোন্দকার শারাফৎ হোসেন যুগ্ম  আহ্বায়ক পৌর বিএনপি, জনাব মোঃ হাফিজুর রহমান স্বপন যুগ্ম আহ্বায়ক পৌর বিএনপি, জনাব মোঃ মিজানুর রহমান খোকন যুগ্ম আহ্বায়ক পৌর বিএনপি।

উক্ত দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন  কোটচাঁদপুর  পৌর বিএনপি শীর্ষ নেতৃবৃন্দ সহ যুবদল, ছাত্র দল, সেচ্ছাসেবক দল,সহ অঙ্গওসহযোগী সংগঠনের অগনিত নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

স্বপ্নের রেস্টুরেন্ট হারফিতে ওয়েটার পদে চাকরি করার সুযোগ

স্বপ্নের রেস্টুরেন্ট হারফিতে ওয়েটার পদে চাকরি করার সুযোগ

ইন্টার্ভিউর সম্ভাব্য তারিখঃ ১০ নভেম্বর। দেশঃ সৌদি আরব। Harfy Resturent বেতনঃ ৯০০ ( + ওভারটাইম) রিয়াল। ডিউটিঃ ৮ ঘন্টা + ওভারটাইম। থাকাঃ কোম্পানির। খাওয়াঃ নিজের। আকামাঃ কোম্পানির। যোগ্যতাঃ S.S.C পাশ। বয়সঃ ২২/৩১ বছর। * প্রার্থীকে অবশ্যই বেসিক ইংরেজি জানতে হবে। *দেখতে স্মার্ট ও সুদর্শন হতে হবে। *কাজের প্রতি মনোযোগী হতে হবে। ইন্টার্ভিউর দিন যা যা লাগবে_____ অর্জিনাল পাসপোর্ট, ৪ কপি ছবি, শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেট এর ফটোকপি ও উক্ত কাজের কোনো অভিজ্ঞতা থাকলে অভিজ্ঞতার সনদ। ইন্টার্ভিউর জন্য সকাল ৯ টার মধ্যে অফিসে উপস্থিত থাকতে হবে। 

বিঃদ্রঃ সৌদিআরব, কাতার, কুয়েত, ওমান, জর্দান, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, গাম্বিয়া, সার্ভিয়াসহ বিশ্বস্ততার সাথে বিভিন্ন দেশের ভিসা প্রসেসিং করা হয়। যোগাযোগঃ- 01902 529252. মোঃ ইমরান খান। পরিচালক- জে,এস,এ ওভারসীজ। আর এল ১৬৯৫।  

মুক্তিযোদ্ধরায় এই জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান- প্রকৌশলী জয়

 মুক্তিযোদ্ধরায় এই জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান- প্রকৌশলী জয়

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃসাবেক সাংসদ প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় বলেন মুক্তিযোদ্ধারাই এই জাতীর শ্রেষ্ট সন্তান। তাঁরা আমাদের গৌরব,যারা দেশের স্বাধীনতার জন্য জীবন দিয়েছেন এবং যে বীর মুক্তি যোদ্ধাগণ বেছে রয়েছেন আমরা নতুন প্রজন্ম যেনারা শহীদ হয়েছেন তাদেরকে আমরা গভীরভাবে স্মরন করি,এবং যারা জীবিত রয়েছেন তাদেরকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি যেন আমারণ তাদের ক্ষেদমত করতে পারি। প্রকৌশলী জয় বলেন যেহেতু সমাজে আপনাদের গ্রহনযোগ্যতা রয়েছে কাজেই আসছে ১২ নভেম্বর উপনির্বাচনে আপনাদের সহযোগীতা কামনা করছি। গতকাল বুধবার কাজিপুরে সিরাজগঞ্জ ১ কাজিপুর আসনের অন্তগত মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে আ,লীগ মনোনীত প্রার্থী প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার গাজী ইউনুস উদ্দিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপজেলা চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার সোহরাবহোসেন,শফিকুল ইসলাম শফি,ডিপুটি কমান্ডার আশরাফুল ইসলাম জগলু,আব্দুল বারি,শাহজাহান আলী,ফারুক হোসেন,কাজিপুরের সাবেক কমান্ডার আব্দুরশিদ,ডিপুটি কমান্ডার আব্দুস ছালাম প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

আদালতের আদেশ অমান্য করে গৃহ নির্মাণ, থানায় অভিযোগ

আদালতের আদেশ অমান্য করে গৃহ নির্মাণ, থানায় অভিযোগ



ছৈয়দ মুহাম্মদ আরিফুল ইসলাম পটিয়া থেকেঃ  পটিয়ার ছনহরা ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডে আমিন শরীফ এর বাড়িতে আদালতের আদেশ অমান্য করে জোরপুর্বক গৃহ নির্মাণ কাজ  করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় মৃত আমিন শরীফ এর ছেলে নুরুল আলম বাদী হয়ে একই বাড়ির বদিউল আলম এর বিরুদ্ধে পটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। সুএে জানাযায়, দীর্ঘদিন যাবত নুরুল আলম এর সাথে বদিউল আলম এর মধ্যে পৈত্রিক সম্পক্তি ভাগবাটোয়ারা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ সংক্রান্তে নুরুল আলম ২৭ সেপ্টেম্বর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত চট্টগ্রাম (দক্ষিণ) ফৌজদারি কার্যবিধি আইনে ১৪৫ ধারা বিধান মতে মিছ মামলা নং ১৯৭৬/২০ ইং দায়ের করে। আদালত উক্ত বিরোধীয় জায়গায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য পটিয়া থানার ওসিকে  নির্দেশ  প্রদান করে। কিন্তু প্রতিপক্ষ বিবাদী বদিউল আলম ৩ অক্টোবর সকাল ৮টার সময়     আদালতের আদেশ অমান্য করে জোরপুর্বক গৃহ নির্মাণ কাজ চালায়।  নুরুল আলম  বাঁধা দিলে তাকে হত্যার হুমকি দেয় পটিয়া থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সুএে প্রকাশ। এছাড়াও নুরুল আলমকে বদিউল আলম  বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দিলে বদিউল আলম এর বিরুদ্ধে ৮ অক্টোবর পটিয়া থানায় একটি জিডি নং ৪৬৬/২০ ইং দায়ের করে।                তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মুক্তার হোসেন ভুঁইয়া জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে বিবাধী বদিউল আলম এর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। নুরুল আলম জানান,  বদিউল আলম আমার মেয়ের জামাই মহিউদ্দিন হত্যা মামলার আসামি  আর এই মামলায় আমি স্বাক্ষী যাতে আমি আদালতে স্বাক্ষী না দেওয়ার জন্য   এবং আমার সম্পক্তি আর্তসাৎ করতে সে সন্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে বলে অভিযোগ করেন।

নারী ও শিশু সহিংসতা প্রতিরোধে সচেতনতা মূলক উঠান বৈঠক

 নারী ও শিশু সহিংসতা প্রতিরোধে সচেতনতা মূলক উঠান বৈঠক

কয়রা(খুলনা)প্রতিনিধিঃ নারী ও শিশুর প্রতি সকল ধরনের সহিংসতা প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে গত সোমবার বিকাল ৩ টায় কয়রা উপজেলার কুশোডাঙ্গা ফাজিল মাদ্রাসায় উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। কয়রা উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা অধিদপ্তর, কয়রার আয়োজনে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। কুশোডাঙ্গা ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মো. রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ উঠান বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কয়রা উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস। একই দিন বিকাল সাড়ে ৪ টায় উপজেলার হড্ডা ডি এম মাধ্যমিক বিদ্যালয় চত্বরে  নারী ও শিশুর প্রতি সকল ধরনের সহিংসতা প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক নিহার রঞ্জন সরকারের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কয়রা উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার মো. আব্দুর রশিদ খান, প্রভাষক মো. আনিসুজ্জামান, ইউপি সদস্য মহাশীষ সরদার, অচিন্ত ম-ল প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ শতাধিক মা ও পুরুষ অভিভাবক উপস্থিত ছিলেন।

ঝিনাইদহে মাস্কবিহীন মানুষকে জরিমান

 ঝিনাইদহে  মাস্কবিহীন মানুষকে জরিমান

সোহান হোসেন, সদর ( ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃঝিনাইদহ পায়রা চত্তর পোষ্ট অফিস মোড়ে মাস্ক বিহীন মানুষের জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্টেট ইরফানুল হক।এসময় তিনি সরকারী দন্ডবিধি অনুযায়ী যারা মাস্ক ছারা চলাচল করছিলেন তাদের প্রত্যেককে দণ্ডবিধি অনুযায়ী ২০০ টাকা করে জরিমানা  করেন অন্যথায় ছয়মাসের কারাডন্ড।এবং প্রত্যেক মানুষ কে মাস্ক ব্যাবহার করতে বলেন। তারা মোট ১১জনকে জরিমানা করেন।

করোনা ভাইরাস এক আতঙ্ক জীবাণুভাইরাস।এই ভাইরাস  একজন মানুষ থেকে অন্য মানুষের দেহে মুহূর্তে ছরিয়ে জেতে পারেন। অনেক দেশে এই ভাইরাস এর কারণে  হাজার হাজার মানুষ প্রাণ দিচ্ছেন। আমাদের  বাংলাদেশে প্রতিদিন এই ভাইরাস এর কবলে অনেক মানুষ জীবন হারাচ্ছেন।এর ই পরিপ্রেক্ষিতে সরকারী আদেশ অনুযায়ী মাস্ক ছারা মানুষ কে ঘরথেকে বের হতে নিষেধ করেন।বিশ্বসাস্থসংস্থা বলেন লগ ডাউন না থাকলেও মানুষকে মাস্ক পড়া ব্যাধ্য করতে হবে,তাদের তথ্য অনুযায়ী ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত মানুষ যদি মাস্ক ব্যবহার করেন তাহলে কিছুটা হলেও মানুষ এই ভাইরাস এর কবল থেকে মুক্তি পাবে। 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেন প্রত্যেক সরকারি বেসরকারি অফিস আদালত এ মাস্ক ব্যাবহার বাধ্যতামূলক করেন। তিনি প্রত্যেক মানুষকে মাস্ক ব্যবহার করতে বলেন তা না হলে শাশ্তির বিধান করেন,তিনি আরো বলেন নো মাস্ক নো সার্ভিস।

শৈলকুপায় হতদরিদ্রদের ঘর, নিজের ভাই ভাতিজাদের করে দিলেন চেয়ারম্যান

শৈলকুপায় হতদরিদ্রদের ঘর, নিজের ভাই ভাতিজাদের করে দিলেন চেয়ারম্যান



সম্রাট হোসেন, শৈলকূপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন তার নিজের ভাই ভাতিজাদের সরকারী ঘর করে দিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন। ঘর প্রাপ্তরা দুঃস্থ বা হতদরিদ্র নন। রীতিমত প্রভাবশালী এবং বংশ মর্যাদা সম্পন্ন হিসেবে এলাকায় পরিচিত। খোদ চেয়ারম্যানের পৈত্রিক ভিটাই বাহারী রঙের সরকারী ঘর সবার নজর কেড়েছে।

এ ধরণের তিনটি সরকারী ঘর তিনি তার নিজের পরিবারের মধ্যে তৈরী করে দিয়েছেন। পথচারিরা এই সরকারী ঘর দেখছেন ও নানা মন্তব্য করছেন। সরেজমিন দেখা গেছে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে টিআর-কাবিটা কর্মসূচির আওতায় দূর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ প্রকল্পের ২টি ও আগের বছরে জমি আছে ঘর নাই প্রকল্পের একটিসহ মোট ৩টি পাকা সরকারি ঘর নির্মিত হয়েছে শৈলকুপার হুদামাইলমারী গ্রামে। ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মকবুল হোসেন তার বড় ভাই মৃত আজিবর মন্ডলের ছেলে নজরুল ইসলাম ও শামছুল ইসলাম এবং মেজো ভাই মোকাদ্দেস মন্ডলের ছেলে আমিরুল ইসলামের একটি পাকা ঘর করে দিয়েছেন।

আপন ভাই ভাতিজার ভিটেয় সরকারি পাকা ঘর তুলে দেওয়ায় এলাকাজুড়ে চাপা ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। এলাকার মাসুদ রানা নামে এক ব্যক্তি জানান, চেয়ারম্যানের ভাই ভাতিজাদের নামে সরকারি ঘর করে দিলেও ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করেনা। গ্রামবাসি ভাষ্য আমিরুলের ছেলে ফিরোজুর রহমান গোপালগঞ্জ জেলায় কর্মরত কৃষিব্যাংকের কর্মকর্তা। তাছাড়া চেয়ারম্যান পরিবারে যথেষ্ট সম্পদ এবং প্রভাব প্রতিপত্তি রয়েছে। শেরপুর গ্রামের মৃত সৈয়দ আলীর ছেলে নুর ইসলাম চুন্টু অভিযোগ করেন, তিনি প্রকৃত গৃহহীন হলেও একাধিকবার চেষ্টা করেও তিনি ঘর পান নাই। জরাজীর্ণ খুপরিঘরে দীর্ঘদিন বসবাস করছেন। শৈলকুপার ভারপ্রাপ্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নিউটন বাইন জানান, আমি সবে মাত্র অতিরিক্ত দায়িত্ব নিয়েছি। এ ধারণের অনিয়ম ও সেচ্ছাচারিতার কথা আমার জানা নেই।তবে ২ লাখ ৯৯ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত ২টি পাকা ঘর যদি কোন চেয়ারম্যান অবস্থাশালীদের দিয়ে থাকেন তবে সেটা হবে নিন্দনীয় কাজ। তিনি বলেন,ঘরের সুবিধাভোগীর নাম নির্বাচনের এখতিয়ার চেয়ারম্যানদের। এই সুযোগে এমনটি হতে পারে। হরিণাকুন্ডুর ইউএনও সাইফুল ইসলাম জানান, আমি শৈলকুপা থেকে বদলী হয়ে চলে যাচ্ছি। বিদায় বেলায় আমি কোন মন্তব্য করতে চাই না। তবে চেয়ারম্যানের আত্মীয় স্বজনরা যদি অসচ্ছল হয় তবে দিতে পারেন। এ ব্যাপারে মির্জাপুর ইউনিয়ন সচিব রকিব উদ্দীন আল-ফারুক জানান, যতুটুকু জানি চেয়ারম্যানের ভাই-ভাতিজাগনও খুব স্বচ্ছল নন। তবে ব্যাংক কর্মকর্তার ভিটে বাড়িতে ঘর তোলার বিষয়টি তিনি এড়িয়ে যান।বিষয়টি নিয়ে চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেনের বক্তব্য জানতে তার কাছে একাধিক ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

ঝিকরগাছায় দারিদ্র্য বিমোচনের লক্ষ্যে পুষ্টি সমৃদ্ধ শস্যের বীজ বিতরণ

ঝিকরগাছায়  দারিদ্র্য বিমোচনের লক্ষ্যে পুষ্টি সমৃদ্ধ শস্যের বীজ বিতরণ

মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত, ঝিকরগাছা প্রতিনিধিঃঝিকরগাছায় বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক আয়োজিত "দারিদ্র্য বিমোচনের লক্ষ্যে পুষ্টি সমৃদ্ধ উচ্চমূল্যের অ-প্রধান শস্য উৎপাদন ও বাজারজাতকরণ কর্মসূচি" শীর্ষক প্রকল্পের সদস্য দের মধ্যে "অ-প্রধান শস্যের" বীজ বিতরণ করা হয়। ঝিকরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব আরাফাত রহমান এর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব মোঃ মনিরুল ইসলাম।বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জনাব মোঃ সেলিম রেজা।এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমাজসেবা অফিসার এ.এফ.এম ওয়াহিদুজ্জামান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এ এস এম জিলুর রশিদ, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসার বি এম কামরুজ্জামান প্রমূখ।

সোনারায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর উদ্যোগে শোক র‌্যালী

সোনারায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর উদ্যোগে শোক র‌্যালী

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে ৩ অক্টোবর মঙ্গলবার বগুড়ার গাবতলী সোনারায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন এর উদ্যোগে স্থানীয় আটাপাড়া বাজারে শোক র‌্যালী ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে।ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম ছুন্নু সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সোনারায় ইউনিয়নে দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা উপজেলা আওয়ামীলীগ এর যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা আ’লীগ নেতা দুলাল করিম দুলাল, সোনারায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান আলতাব, ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান ও আ’লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম।

জেলা ছাত্রলীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক জিহাদ আল হাসান জুয়েল, আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন টুকু, জহুরুল ইসলাম, সুমন মিয়া, আব্দুল হান্নান, আজাহার, মতিয়ার, মন্টু মিয়া, ফুল মিয়া, ইউপি সদস্য আলেক উদ্দিন কালু, যুবলীগ নেতা জিল্লুর রহমান সাকিন ও মমিনুল ইসলাম মুক্তার, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগ এর সভাপতি আবু হায়াত সুইট, সাধারন সম্পাদক ইউসুফ আলী, ছাত্রলীগ নেতা আরিফ, রহিম, শ্রমিকলীগ নেতা ফরহাদ হোসেন রুবেল, মমিনুল ইসলাম মমিন, কৃষকলীগ নেতা ওলিউল হক ও ডি কে শামীম প্রমূখ।

শৈলকুপা উপজেলা চেয়ারম্যানের মৃত্যু

শৈলকুপা উপজেলা চেয়ারম্যানের মৃত্যু



সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃশৈলকুপা উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শিকদার মোশাররফ হোসেন সোনা মৃত্যুবরণ করেছেন। বুধবার সকালে তিনি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।জানা যায়, বুধবার সকালে উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিকদার মোশাররফ হোসেন হঠাৎ অসুস্থ হয়ে গেলে তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন বলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন।

দুপুরের মধ্যেই ঝিনাইদহ হাসপাতাল থেকে তার মৃতদেহ শৈলকুপা পৌর এলাকার খালকুলা গ্রামের নিজ বাড়িতে পৌছাবে বলে স্বজনরা জানিয়েছেন।বাদ আছর তার নামাজে যানাজা অনুষ্ঠিত হবে।মৃত‌্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৭২ বছর। তিনি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে দেশ স্বাধীনে অংশ নেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ১ মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।তিনি শৈলকুপা উপজেলার পরিষদের পরপর দুবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি ও এর আগে দীর্ঘদিন যাবৎ সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে এসেছেন। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

মোহাম্মাদ পুর সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নিহত

 মোহাম্মাদ পুর সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নিহত

মোঃকুতুবুল আলম, মহম্মদপুর(মাগুরা) প্রতিনিধিঃমাগুরার মহম্মদপুর উপজেলায় সপ্তম বার্ষিকী বিহারি লাল শিকদার নৌকা বাইচ দেখতে এসে মটরসাইকেল ও ট্রলির সংঘর্ষে ট্রলি উল্টে আলতাব শিকদার (৬৫) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী গুরুত্বর আহত হয়েছেন। আহতদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ট্রলির ড্রাইভার পালাতক রয়েছেন।  বুধবার দুপুর ১ টার দিকে মাগুরা-মহম্মদপুর সড়কের ফায়ার সার্ভিস এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।  নিহত ব্যক্তি মাগুরা সদর উপজেলার মঘী ইউনিয়নের দক্ষিন বিরপুর গ্রামের মৃত ছায়েন শিকদারের ছেলে।  প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, বিহারী লাল শিকদার নৌকা বাইচ উপলক্ষে সকাল থেকেই মহম্মদপুর উপজেলা সদরে লোকসমাগম বাড়তে থাকে। এদিন সকাল থেকে পাশ্ববর্তী জেলা ফরিদপুর নড়াইল ও মাগুরা সদর থেকে নৌকা বাইচ দেখতে মানুষ জড় হয়। মহম্মদপুরের উদ্দ্যেশে মানুষ বোঝাই মাগুরা সদর থেকে একটি ট্রলি ছেড়ে আসে। পথে  মাগুরা-মহম্মদপুর সড়কের ফায়ার সার্ভিস এলাকায় পৌঁছালে মটরসাইকেলের পেছনে ধাক্কা দিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এসময় একজন ট্রলির যাত্রী চাপা পড়ে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়। এ সময় আহত হন দুই মোটরসাইকেল আরোহী। আহতদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।  পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়ে.

সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলামের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি

সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলামের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি

 


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃ বুধবার সকালে যশোর উন্নয়নের কারিগর, সাবেক সফল মন্ত্রী, বষীয়ান রাজনীতিবিদ বিএনপি'র জাতীয় স্থায়ী কমিটির প্রয়াত সম্মানিত সদস্য, জননেতা তরিকুল ইসলামের ২য় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে প্রয়াত নেতার কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও কবর জিয়ারত করেন ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি।পুষ্পমাল্য অর্পণ ও কবর জিয়ারতের সময় উপস্থিত ছিলেন, প্রয়াত নেতার সুযোগ্য পুত্র, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক,জননেতা, অনিন্দ ইসলাম অমিত।ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক, বীর মুক্তিযোদ্ধা, অধ্যক্ষ এ্যাড. এস এম মশিয়ুর রহমান।ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির সদস্য সচিব, জননেতা আলহাজ্ব  এ্যাড. এম এ মজিদ।ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ আক্তারুজ্জামান, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি'র যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ জাহিদুজ্জামান মনা, ঝিনাইদহ সদর উপজেলা বিএনপি'র আহবায়ক, এ্যাডঃ মুন্সি কামাল আজাদ পান্নু, ঝিনাইদহ পৌর বিএনপির আহবায়ক, মোঃ আব্দুল মজিদ বিশ্বাস, জেলা বিএনপি'র সদস্য ও জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক,মোঃ আশরাফুল ইসলাম পিন্টু সহ জেলার সকল উপজেলা ও পৌর বিএনপি শীর্ষ নেতৃবৃন্দ সহ অঙ্গওসহযোগী সংগঠনের অগনিত নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শর্ত সাপেক্ষে জেলেদের সাগর ও দুবলার চরে যাওয়ার অনুমতি

শর্ত সাপেক্ষে  জেলেদের সাগর ও দুবলার চরে যাওয়ার অনুমতি

মোঃএরশাদ হোসেন রনি,মোংলাঃআসছে শীতে করোনা প্রকোপ বাড়ার আশংকা মাথায় রেখেই স্বাস্থ্য বিধি মানা শর্তে জেলেদের সাগর ও দুবলার চরে যাওয়ার অনুমিত দিয়েছে বনবিভাগ। তাই ৫ নভেম্বর থেকে বঙ্গোপসাগর পাড়ে সুন্দরবনের দুবলার চরে শুরু হতে যাচ্ছে মাছ আহরণ ও শুটকি প্রক্রিয়াকরণ মৌসুম। এ মৌসুমকে ঘিরে এখন উপকূলীয় এলাকার জেলেদের মধ্যে চলছে জাল ও নৌকা মেরামতসহ চরে অস্থায়ী বসত গড়ার নানা সরঞ্জামাদি সংগ্রহের প্রস্তুতি। প্রস্তুতিও এখন প্রায় শেষ পযার্য়ে। এখন শুধু যাওয়ার পালা। পাস পারমিট নিয়ে ৫ নভেম্বর সকাল থেকে সাগরের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করবে জেলেরা। তবে শীতকালীন করোনা মহামারী থেকে বাঁচতে চরে অস্থায়ী হাসপাতাল কিংবা চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থার দাবী জানিয়েছেন জেলেদের।  

প্রতি বছর শীত মৌসুমের আগ মুহুর্তেই শুরু হয় দুবলার চরে শুটকি মৌসুম। এবার চলতি বছরের নভেম্বর থেকে আগামী বছরের মার্চ মাস পর্যন্ত চলবে এ মৌসুম। মৌসুমকে ঘিরে উপকূলের কয়েক হাজার জেলে জড়ো হয় দুবলার চরে। মাছ ধরার জন্য নৌকা ও জাল নিয়ে তারা যান সমুদ্রে। আর চরে থাকাসহ মাছ শুকানো ও রাখার জন্য অস্থায়ী বসত গড়ে তোলেন জেলেরা। সুন্দরবনের সকল ধরণের গাছ কাটা নিষিদ্ধ করায় জেলেরা সাথে করে নিয়ে যান ঘর তোলার বাঁশ, কাঠসহ অন্যান্য জিনিসপত্র। চরে ৫ মাস ধরে তারা মাছ আহরণ ও শুটকিকরণ কাজ করে থাকেন তারা। এখন উপকূল জুড়ে জেলেদের মাঝে চলছে সাগর ও সুন্দরবনে যাওয়ার শেষ সময়ের প্রস্তুতি। হাতে খুব বেশি সময় নেই তাই যে যার ধর্ম অনুযায়ী নৌকায় মিলাদ ও পূজার আনুষ্ঠানিকতাও সেরে নিচ্ছেন। ৪ নভেম্বর এ সকল জেলেরা জড়ো হবেন মোংলার পশুর নদীর চিলা খালে। বনবিভাগের কাছ থেকে পাস পারমিট নিয়ে ৫ নভেম্বর দল বেধে ছেড়ে যাবেন দুবলার উদ্দেশ্যে। তবে জেলেরা বলছেন, বিগত বছরগুলোর মত এবার আর দুস্যতার ভয় নেই তাদের মাঝে। তবে জেলেদের অভিযোগ রয়েছে, পথে ঘাটে দস্যুদের চেয়েও বেশি অত্যাচার নিযার্তন করে থাকেন বনবিভাগের কতিপয় সদস্যরা। তাই এ থেকে পরিত্রাণের জন্য তারা সংশ্লিষ্ট কতর্পনক্ষের হস্তক্ষেপও কামনা করেছেন। 

মোংলার চাঁদপাই গ্রামের জনৈক এক জেলে অভিযোগ করে বলেন, আমি এবার ৩০ জন জেলে নিয়ে সাগরে যাচ্ছি। সেখানে সমস্যা অনেক। যেমন সেখানে কোন হাসপাতাল নেই, আমাদের কেউ অসুস্থ্য হলে চরম দুভোর্গে পড়তে হয়। কেউ অসুস্থ্য হওয়ার পর মোংলায় আনতে আনতে পথেও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। আমরা চাই সেখানে একটি হাসপাতাল করা হোক। 

তিনি অভিযোগ করে আরো বলেন, আমরা নদী পথে যাওয়ার সময় ফরেস্টার ঝামেলা করে বেশি। এরা ডাকাতের চেয়েও বেশি খারাপ। ডাকাত ২০ নিয়ে ছাড়ে ও ওরা (ফরেস্টার) ৪০/৫০ হাজার না হলে ছাড়েনা। এখন সমস্যা ফরেস্টারই বেশি করছে। 

আসছে শীত মৌসুমের পুরাটাই জেলেদের থাকতে হবে সাগর ও সুন্দরবনে তাই করোনার প্রকোপ বাড়লে তাদের পড়তে হবে চরম বিপদে। তাই চরে হাসপাতাল কিংবা চিকিৎসা সেবা কেন্দ্র স্থাপনের দাবী জেলেদের।  জেলেদের এ যৌক্তিক দাবীর বিষয়ে সেভ দ্যা সুন্দরবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. শেখ ফরিদুল ইসলাম বলেন, করোনা প্রাদুর্ভাবের মধ্যেই দুবলা চরের ২৫ থেকে ৩০ হাজার জেলে মাছ আহরণ ও শুটকি তৈরির কাজ করতে জড়ো হবে। সেখানে যেহেতু অনেক লোকের সমাগম ঘটবে তাই তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে সেখানে ভাসমান স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র স্থাপন জরুরী বলে তিনি মনে করেন। তিনি বলেন, তা না হলে ওখানে যে কোন একজন কোনভাবে সংক্রমিত হলে তা ছড়িয়ে যাবে বৃহৎ জনগোষ্ঠীর মাঝে। পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকতার্ মো: বেলায়েত হোসেন বলেন, শীতে করোনার প্রকোপ বাড়বে। তাই স্বাস্থ্য বিধি মানাসহ বেশ কিছু শর্তে জেলেদেরকে সাগরে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়েছে। আর করোনা বিধি নিষেধের বিষয়টি গুরুত্বেও সাথে দেখা ও ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দুবলা ফিসারম্যান গ্রুপের নেতৃবৃন্দদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। 

তবে স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতে সেখানে কোন হাসপাতাল স্থাপন করা হবে কিনা তার জবাব মেলেনি বনবিভাগের পক্ষ থেকে। গত মৌসুমে দুবলার চর থেকে রাজস্ব আদায় হয়েছিল ৩ কোটি ১৭ লাখ টাকা। আর এবার টার্গেট ধরা হয়েছে ৩ কোটি ২০ লাখ টাকা। আবহাওয়ার উপর নির্ভর করবে রাজস্ব আদায় কম-বেশির পরিমাণ। 

জেলেদের উত্থাপিত অভিযোগ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে সুষ্ঠুভাবেই এ মৌসুম পার করতে পারবেন জেলেরা সেই সাথে রাজস্ব আদায়ের মধ্যদিয়ে আর্থিকভাবে লাভবান হবেন বনবিভাগও। #

চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এর পিতার ইন্তেকাল,শোক প্রকাশ

চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এর পিতার ইন্তেকাল,শোক প্রকাশ

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফুলসারা ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী মাসুদ চৌধুরীর পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম চৌধুরীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন চৌগাছা- ঝিকরগাছা আসনের মাননীয় সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা ,মেজর( অব) জেনারেল ( অব) ডাক্তার অধ্যাপক মোঃ নাসির উদ্দিন । মঙ্গলবার বেলা ১১:৩০ মিনিটে ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন তিনি। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন।

শোক বার্তায় তিনি শোকতপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

জন্ম নিবন্ধন জালিয়াতি, সাবালিকা দেখিয়ে বাল্য বিয়ে

জন্ম  নিবন্ধন জালিয়াতি, সাবালিকা দেখিয়ে বাল্য বিয়ে

কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি : জন্ম নিবন্ধন জালিয়াতিতে সহায়তা করেন ইউপি চেয়ারম্যান, তারপর নাবালিকা মেয়েকে সাবালিকা দেখিয়ে বিয়ে দেন কনের বাবা। এমনি একটি বিতর্কমৃলক ঘটনা ঘটেছে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার ১নং প্রাগপুর ইউনিয়নে । মেয়েটির প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সনদ বলছে মেয়েটির জন্ম ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০০৭ । ২০১৬ সালে মেয়েটি পরীক্ষা দেয় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী তাহলে মেয়েটির এখন পড়ার কথা ৯ম শ্রেণীতে । সে হিসাবে তার বর্তমান বয়স দাঁড়ায় প্রায় ১৩ বছর ।
সম্প্রতি জন্ম নিবন্ধন জালিয়াতি করে এক পিতা তার নাবালিকা ৯ম শ্রেণি পড়ুয়া কন্যাকে বাল্য বিবাহ দেওয়ার ঘটনা ফাসঁ হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে,উপজেলার ১নং প্রাগপুর ইউনিয়নের মুসলিম নগর গ্রামে ।
এদিকে প্রতিবেদকের হাতে আসে একই নামের আরেকটি জন্ম নিবন্ধন সনদ যা মেয়েটির প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সনদের সাথে মিলে যায়। জন্ম নিবন্ধন সনদ টি প্রদান করা হয় ভেড়ামারা পৌরসভা থেকে । যেটি ইস্যুর তারিখ ২৫,০৫,২০১৫ ও নিবন্ধন বহি নং ০৮। তাহলে এবার প্রশ্ন দাঁড়ায় একজন ব্যক্তির ভিন্ন বয়সের জন্ম সনদ দুটি হলো কিভাবে ? যা এখনও রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন স্থানীয় সরকার বিভাগের ওয়েব সাইটে বহাল ।
একটি সূত্রে জানা যায়, মুসলিম নগর গ্রামের মোঃ সোহরাব হোসেন তার নাবালিকা কন্যা স্কুল ছাত্রী মোছাঃ সুরাইয়া ইয়াসমিন সুরভীর বিবাহ দেওয়ার জন্য স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জন্ম নিবন্ধনে মেয়ের বয়স বাড়িয়ে একটি সার্টিফিকেট করে নেয় । এর পর ওই জন্ম নিবন্ধন দিয়ে তার মেয়েকে বিয়ে দেন চলতি বছরে জুন মাসের ২৯ তারিখে ।
এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মুকুল মাস্টারের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি ০২ নভেম্বর প্রতিবেদককে বলেন, আমি মেয়েদের জন্ম সনদ প্রদানের আগে তাদেরকে স্ব শরীরে দেখে তারপরে স্বাক্ষর করি তবে তার পরিষদ থেকে অপ্রাপ্ত বয়সকো মেয়েদের বয়স বাড়িয়ে জন্ম সদন দেবার বিয়য়ে তিনি বলেন এটা হওয়ার কথা না তারপরেও আমি বিষটি দেখে আপনাকে কাল পরশু জানাব । তাকে ০৩ নভেম্বর রাতে মুঠোফোনে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন আমি বিষয়টি দেখেছি ওই মেয়েটি তার এস.এস.সি সার্টিফিকেট দেখিয়ে জন্ম সনদটি তৈরি করেছে ।
২৩,০২,২০১৯ তারিখে ইস্যু একি ব্যাক্তির আরেকটি জন্ম নিবন্ধন সনদ যার নিবন্ধন বহি নং ১৪। এই নিবন্ধনটি তৈরি করাহয় উপজেলার ১ নং প্রাগপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে যা বহাল আছে রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন স্থানীয় সরকার বিভাগের ওয়েব সাইটে ।
এদিকে মেয়েটি বর্তমানে মহিষকুন্ডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছত্রী বলে জানিয়েছেন একটি বিশস্ত সুত্রে।

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে কোটচাঁদপুর রিপোর্টাস ইউনিটির তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

 নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে  কোটচাঁদপুর রিপোর্টাস ইউনিটির তৃতীয়  প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃ নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে কোটচাঁদপুর রিপোর্টাস ইউনিটির তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে নানা আয়োজন করে সংগঠনটি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কোটচাঁদপুর মেইন বাসস্ট্যান্ডে রিপোর্টাস ইউনিটির কার্যালয়ে আমন্ত্রিত প্রধান অতিথি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কোটচাঁদপুর সার্কেল মোহাইমিনুল ইসলাম কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আনুষ্ঠানিক পর্বের উদ্বোধন করেন। এর আগে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও বিশেষ দোয়া করানো হয়।
পরে রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়ে ‘আগামী দিনের সাংবাদিকতা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রিপোর্টাস ইউনিটি"র সভাপতি মামুনার রশীদ সুমন এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার জাহিদ জামান এর সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার মেয়র জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন, কালের কন্ঠ পত্রিকার কোটচাঁদপুর প্রতিনিধি কাজী মৃদুল,যায় যায় দিন পত্রিকার প্রতিনিধি আলমগীর খান,পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক জাহিদ হোসেন, উপজেলা শ্রমিকলীগের আহবায়ক শফিকুর রহমান, সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক এনায়েত উল্লাহ সৈকত প্রমূখ।
এ সময় রিপোর্টার্স ইউনিটিতে কর্মরত সাংবাদিকরা ছাড়াও ক্রিয়াশীল ছাত্র সংগঠন ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

কুলাউড়ায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

 কুলাউড়ায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক


মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃমৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার দানাপুর এলাকায় ৩ নভেম্বর মঙ্গলবার রাতে মুন্নি বেগম (২১) নামে এক সন্তানের জননীর লাশ উদ্ধার করেছে কুলাউড়া থানা পুলিশ। এ ঘটনায় মুন্নি বেগমের স্বামী ইয়াদ আলী পলাতক রয়েছেন।

জানা যায়, কুলাউড়া উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নের দানাপুর নিবাসী ইয়াদ আলী (২৬) তার স্ত্রী মুন্নি বেগমকে মঙ্গলবার বিকালে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় কুলাউড়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তার শারীরিক অবস্থা আশংকাজনক থাকায় তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরে স্বামী ইয়াদ আলী জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার স্ত্রী মারা যায়। পরে লাশ নিয়ে সন্ধ্যায় সে বাড়ি ফিরে আসে। এরপর ইয়াদ আলী তার স্ত্রীর লাশ বাড়িতে রেখে পালিয়ে যায়।স্থানীয়রা জানান , স্বামী ইয়াদ আলীর নির্যাতনে মুন্নি বেগমের মৃত্যু হয়েছে।এদিকে স্বামীর নির্যাতনে মুন্নি বেগমের মৃত্যুর খবর পেয়ে কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাদেক কাওসার দস্তগীর এবং কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসানসহ পুলিশ রাতে লাশের বাড়িতে যান। পরে পুলিশ লাশের সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করে।কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে ও ইয়াদ আলীকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

জজ কোর্টের পিপি লতিফের ঘুষ-দুর্নীতির, কুশপুত্তলিকা দাহ

জজ কোর্টের পিপি লতিফের ঘুষ-দুর্নীতির, কুশপুত্তলিকা দাহ


আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা জজ কোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাড.আব্দুল লতিফের অনিয়ম দূর্ণীতি ও সরকারি আইন কর্মকর্তা নিয়োগের নামে ঘুষ গ্রহণ, প্রধানমন্ত্রি শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা মামলার আসামী পক্ষের আইনজীবীকে পুরষ্কৃত করে পূণরায় অতিরিক্ত পিপি নিয়োগ, পরীক্ষীত নেতা কর্মীদের বঞ্চিত করে স্বাধীনতা বিরোধীদের সরকারি আইন কর্মকর্তা নিয়োগের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ ও কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩নভেম্বর) সকাল ১০টায় জজ কোর্ট সংলগ্ন শহীদ মিনারের পাদদেশে উক্ত বিক্ষোভ কর্মসুচি পালন করা হয়।সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক এবং সাবেক অতিরিক্ত পিপি এড. আজহার হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সাবেক পিপি এড. ওসমান গণি, এড. সঞ্জয় রায় চৌধুরী, এড. সাহেদুজ্জামান সাহেদ, সাবেক অতিরিক্ত জিপি এড. নওশেল আলী প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, বর্তমান জজ কোর্টের পিপি এড. আব্দুল লতিফ ভারতীয় গরুর খাটাল ব্যবসার সাথে সোনা পাচার করে শতকোটি টাকার মালিক হয়েছেন। আব্দুল লতিফ ওরফে খাটাল লতিফ পিপিশিপ দেওয়ার নাম করে ১৫ জন আইনজীবীর কাছ থেকে মাথাপিছু ৭০ হাজার টাকা করে ঘুষ নিয়েছেন। তিনি মামলা পরিচালনার সময় আসামীপক্ষের কাছ থেকে ঘুষ নিয়ে থাকেন। তিনি এর আগে বিডিআর এ চাকুরি করাকালিন দূর্ণীতির দায়ে বহিস্কার হন। তিনি যে স্নাতক সনদ সংগ্রহ করেছেন তা যথাযথ নয়। ওই সনদ যাঁচাই এর জন্য কয়েকজন আইনজীবী আইন মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করেছেন। ২০০২ সালে কলারোয়ায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রি শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এড. জিল্লুর রহমান আসামীপক্ষে অবস্থান নেওয়ায় তৎকালিন পিপি এড. ওসমান গণি তাকে বহিষ্কার করলেও বর্তমান পিপি তাকে আবারওপিপিশিপ দিয়ে পুরস্কৃত করেছেন। তার বিরুদ্ধে বহু নারী কেলেঙ্কারীরও অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়া ঘুষ দূর্ণীতির বিনিময়ে তিনি স্বাধীনতা বিরোধী আইনজীবীদের পিপিশিপ দিয়েছেন। এসব নিয়ে আইনজীবীরা প্রতিবাদ ও প্রধানমন্ত্রি বরাবর স্মারকলিপি দেয়ায় তাদেরকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে।বক্তারা এ সময় পিপি এড. আব্দুল লতিফকে অবিলম্বে পিপিশিপ থেকে পদত্যাগ না করলে আগামীতে বৃহত্তর কর্মসুচি দেয়ার ঘোষণা দিয়ে তার কুশপুত্তলিকা দাহ করেন।