কুষ্টিয়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত.

 কুষ্টিয়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত.


কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃকুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় সড়ক দূর্ঘটনায় পারভেজ মোশারফ (২৩) ও রিংকু হোসেন (২৪) নামের দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছে।মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার সময় কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী মহাসড়কের ভেড়ামারা পারহাউজ যাত্রী ছাউনির সামনে এ দূর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ক্রর্ফোডনগর গ্রামের মিন্টু মিয়ার ছেলে পারভেজ মোশারফ এবং একই এলাকার জিল্লুর রহমানের ছেলে রিংকু হোসেন। 

স্থানীয়রা জানায়, বিকেল সাড়ে চারটার দিকে ঈশ্বরদী থেকে কুষ্টিয়া অভিমুখে যাত্রা করা মোটরসাইকেকে পিছন দিক থেকে অজ্ঞাত যানবাহন ধাক্কা দেয়।  ধাক্কায় মোটরসাইকেলে থাকা দুই আরোহী রাস্তায় ছিটকে পড়ে। এদের মধ্যে রিংকু হোসেন ঘটনাস্থলেই চাকায় পৃষ্ট হয়ে মারা যান। আর পারভেজ মোশারফকে উদ্ধার করে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। পরে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠালে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যায় সে মারা যান। 

ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ জামাল জানান, ধারনা করা হচ্ছে কোন কভারভ্যান/ট্রাকের ধাক্কায় এ ঘটনা ঘটতে পারে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

খুলনায় মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে মোবাইল কোর্টের অভিযান অব্যাহত

খুলনায় মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে মোবাইল কোর্টের অভিযান অব্যাহত



তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা নগর প্রতিনিধিঃআজ নগরীর ৫ টি পয়েন্টে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাব্য দ্বিতীয় ওয়েভ মোকাবেলার প্রস্তুতি হিসেবে অদ্য ১৭ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখে সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেন পিএএ মহোদয়ের নির্দেশে এবং বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোঃ ইউসুপ আলী মহোদয়ের তত্ত্বাবধানে নগরীর ডাক বাংলা, শিববাড়ি মোড়, বৈকালি, মুজগুন্নি ও পাওয়ার হাউজ মোড় এলাকায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালিত হয়। মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব দেবাশীষ বসাক এবং জনাব নূরী তাসমিন ঊর্মি। 

মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে আঠারো-নিম্ন বয়সের বালক-বালিকাদের মাস্ক পরিধান না করার দায়ে কোনরূপ দণ্ড আরোপ না করে তাদেরকে মাস্ক পরতে উদ্বুদ্ধ করা হয়। এসময় কর্তব্যরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদ্বয় মোবাইল ফোনে তাদের অভিভাবকদের সাথে কথা বলেন এবং তাদের সন্তানদের মাস্ক পরিধানপূর্বক ঘরের বাইরে যাতায়াত নিশ্চিত করতে উদ্বুদ্ধ করা হয়।

মাস্ক সাথে না থাকায় এবং সাথে থাকা সত্ত্বেও পরিধান না করা এবং যথাযথভাবে পরিধান না করার দায়ে আটক ও জরিমানা করা হয়। ‘সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮’ এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক এসব জরিমানা করা হয়। 

সম্প্রতি করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় গত ০৮ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখের জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভার সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে ০৯ নভেম্বর, ২০২০ তারিখ থেকে জেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থা গ্রহণ করে। মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন এপিবিএন-এর সদস্যগণ। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে জেলা প্রশাসনের এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর এবং প্রত্যেক্ষ অভিযানে সর্ম্পূণ টাকা উদ্ধার করে ভুক্তভোগীকে ফেরত

তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর এবং প্রত্যেক্ষ অভিযানে সর্ম্পূণ টাকা উদ্ধার করে ভুক্তভোগীকে ফেরত

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ  ঢাকা থেকে এক চাকুরীজীবি ব্যক্তির সারামাসের রোজগার প্রায় ৩৩ হাজার টাকা ভুল করে বিকাশের মাধ্যমে বগুড়ার এক ব্যক্তিকে পাঠানোর পরে রবিবার রাতে অভিযোগ প্রাপ্তির পর প্রায় ৮ ঘন্টার তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর এবং প্রত্যেক্ষ অভিযানে সর্ম্পূণ টাকা উদ্ধার করে ভুক্তভোগীকে ফেরত দিয়েছে বগুড়া সদর থানা এবং ধুনট থানা পুলিশের সদস্যরা।

বগুড়া সদর থানা সূত্রে জানা যায়, ঢাকার এক চাকুরীজীবি ব্যক্তি রাসেল সারামাসের রোজগার প্রায় ৩৩ হাজার ৬’শ ৭৫ টাকা তার পরিবারের নিকট পাঠাতে গিয়ে বিকাশ লেনদেন বিড়ম্বনায় ভুলে চলে আসে বগুড়ার এক ব্যক্তির বিকাশ পার্সোনাল নাম্বারে। টাকা ঢোকার পর একবার সেই ব্যক্তির সাথে কথা হলেও তারপর থেকে সম্পূর্ণ বন্ধ থাকে সেই মোবাইল।

অসহায় হয়ে পরিবারের চিন্তায় হতাশ হয়ে বগুড়ার এক স্থানীয় ব্যক্তির সহযোগিতায় বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী এবং বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবিরের সহযোগিতা কামনা করেন ভুক্তভোগী রাসেল। তৎক্ষনাৎ এই দুই কর্মকর্তার নির্দেশনায় এবং ওসি তদন্ত আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে বিকাশ তথা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সকল সমস্যা সমাধানে সফল এক কর্মকর্তা বগুড়া সদর থানার এস.আই সোহেল রানা খুব দ্রুততম সময়ের মাঝে তথ্যপ্রযুক্তির সহযোগিতা নিয়ে বের করে ফেলেন যাবতীয় সকল তথ্যাদি এবং সোহেল রানা দেখেন টাকাটি ধুনট থানার অন্তগর্ত চৌকিবাড়ি সুশান্ত নামের এক ব্যক্তির বিকাশ নম্বরে রয়েছে এখনো যা ক্যাশআউট করা হয়নি। টাকা উদ্ধারে আশার আলো দেখে সদর থানা পুলিশ তৎক্ষনাৎ বিষয়টি ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃপা সিন্ধু বালা কে অবহিত করেন এবং তার নির্দেশনায় সেই রাত্রিতেই টাকা পাওয়া সেই ব্যক্তি সুশান্তের বাড়ি খুঁজে বের করে অভিযান চালায় ধুনট থানার এস.আই প্রদীপ।

পরে জানা যায় টাকা পাওয়া সেই ব্যক্তিও নিম্নবিত্ত পরিবারের এবং অশিক্ষিত। বিকাশ এ্যাকাউন্ট থাকলেও পাসওয়ার্ড তার জানা ছিল না তাই টাকাও বের করতে পারেনি মর্মে সেই সময় পুলিশকে জানায় সেই সুশান্ত। পরবর্তীতে সোমবার টাকার প্রকৃত মালিক কে পুনরায় নিশ্চিত করে সরাসরি তার কাছে ধুনট থানা থেকেই বগুড়া সদর ওসি হুমায়ুন কবিরের মাধ্যমে বিকাশে সম্পূূর্ণ টাকা ফেরত পাঠিয়ে অসহায় একটি পরিবারের মুখে হাসি ফুটিয়েছে বগুড়ার এই পুলিশ সদস্যরা।

এ ব্যাপারে বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবির জানান, বিকাশ বিড়ম্বনায় বগুড়ায় ভুলে চলে আসা প্রায় ৩৩ হাজার টাকার প্রকৃত মালিক তার সম্পূর্ণ টাকা ফেরত পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে বগুড়া জেলা পুলিশ পরিবারের সদস্যদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। তবে তিনি বিকাশ কিংবা যেকোন অনলাইন বা মোবাইল ব্যাংকিং এ টাকা লেনদেন বিষয়ে সকলকে আরো বেশী সচেতনতা অবলম্বনের আহ্বান জানান। তিনি বলেন এইরকম ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটছে যা প্রতিরোধে সাধারণ মানুষের সচেতনতার কোন বিকল্প নেই।

টাঙ্গাইলে মজলুম জননেতা মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৪৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

টাঙ্গাইলে মজলুম জননেতা মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৪৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

ডা.এম.এ.মান্নান,টাঙ্গাইলে জেলা প্রতিনিধিঃমজলুম জননেতা মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী নানা কর্মসুচির মধ্যদিয়ে পালিত হয়েছে। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে ১৭ নভেম্বর মঙ্গলবার মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ভাসানী ফাউন্ডেশন, ভাসানী পরিবার ও বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্বৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে সন্তোষে ভাসানীর মাজারে পুস্পস্তবক অর্পন করা হয়। এছাড়াও  স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। 

সকালে মজলুম জননেতা মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর মাজারে পুস্পস্তবক অর্পণ ও মাজার জিয়ারতের মধ্য দিয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ আলাউদ্দিন। এরপর ভাসানীর পরিবারের পক্ষ থেকে পুস্পস্তবক অর্পন করা হয়। 

টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাজাহান আনসারী, যুগ্ম সম্পাদক নাহার আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র জামিলুর রহমান মিরনের নেতৃত্বে মাজারে পুস্পস্তবক অর্পন করা হয়।

বিএনপি'র পক্ষ থেকে দলের ভাইচ চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকীভাসানীর মাজারে পুস্পস্তবক অর্পন ও মোনাজাত করেন। 

এদিকে গনস্বাস্থের ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গনসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জুনায়েদ সাকী, ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ন আহবায়ক রাশেদ ভাসানীর মাজারে পুস্পস্তবক অর্পন ও মোনাজাত করেন। এছাড়াও টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট জাফর আহমেদ'সহ প্রেসক্লাবের সদস্যগণ, জেলা জাতীয় পার্টি, কমিউনিষ্ট পার্টি, ভাসানী স্মৃতি সংসদ, ন্যামনাল পিপলস পার্টি, ভাসানী অনুসারী পরিষদ, জাসাস, ভাসানী আদর্শ অনুশীলন পরিষদ, ভাসানী স্মৃতি পরিষদ, ন্যাপ ভাসানী, আওয়ামী সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে পুস্পস্তবক অর্পন করা হয়।

মিরসরাইয়ে স্বপ্নতরী-৭১'র ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ও আলোচনা

মিরসরাইয়ে স্বপ্নতরী-৭১'র ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ও আলোচনা

মিরসরাই প্রতিনিধিঃমিরসরাইয়ে স্বেচ্ছাসেবী ও রক্তদান সংগঠন স্বপ্নতরী-৭১'র উদ্যেগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপ নির্ণয়, থ্যালেসেমিয়া প্রতিরোধ ও রক্তদানের সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন এবং আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) দিনব্যাপী মিরসরাই সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে মিরসরাই সেবা আধুনিক হাসপাতালে সার্বিক সহযোগিতায় বিনামূল্যে সাড়ে ৪শ জন মানুষের ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় এবং সচেতনতা মূলক ২হাজার লিফলেট বিতরণ করা হয়।

স্বপ্নতরী-৭১'র সভাপতি ওমর ফারুক সাকিবের সভাপতিত্বে এবং প্রতিষ্ঠাতা খান মোহাম্মদ মোস্তফা'র সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, মিরসরাই প্রেস ক্লাবের সভাপতি নুরুল আলম।

অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন, মিরসরাই সেবা আধুনিক হাসপাতালের পরিচালক আবদুল রহমান ঈশান।এসময় আরো বক্তব্য রাখেন মিরসরাই সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহিউদ্দিন, মিরসরাই সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক হোসাইন সবুজ, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন শান্তিনীড়'র সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আরশাফ উদ্দিন সোহেল, মিরসরাই থানার এস আই মাকসুদ, দূর্বার প্রগতি সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হাসান সাইফ উদ্দিন, নির্বান যুব সংঘ'র প্রতিষ্ঠাতা তানভীর আহমেদ, মধ্যম আমবাড়িয়া যুব সংঘ'র সভাপতি আলতাফ হোসেন, হিতকরীর সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মাহমুদ, সৃজন যুব সংঘের সভাপতি আসিফুল ইসলাম, প্রজন্ম মিরসরাই যুগ্ন সম্পাদক ইমাম হোসেন, আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মো. হাসান, তাইজুল ইসলাম ফাউন্ডেশন সাধারণ সম্পাদক হারুন উর রশীদ, সেবা আধুনিক হসপিটালের টেকনিশিয়ান সাদেকুল ইসলাম সোহাগ, আদর্শ বন্ধু ফোরামের সভাপতি দীন মোহাম্মদ, মিরসরাই ট্রিবিউন সম্পাদক জাবেদ ভূঁইয়া, স্বপ্নতরী-৭১'র শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক রুপম ইসলাম, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস আহমেদ প্রমুখ।

নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতে পুলিশের বিশেষ অভিযান

নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতে পুলিশের বিশেষ অভিযান

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ আশাশুনিতে নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে দিনভর আশাশুনি টু সাতক্ষীরা সড়কের কুল্যার মোড়ে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আলহাজ্ব শেখ ইয়াছিন আলীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান পরিচালনাকালে সড়কে চলালরত বাস, মিনিবাস, মাইক্রোবাস, ট্রাক, মটরসাইকেল, নসিমন, ইজিবাইক, চার্জার ভ্যানসহ সকল প্রকার যানবাহন থেকে নিষিদ্ধ হাইড্রোলিক হর্ণ ও এলইডি লাইট অপসারণ করা হয়। অভিযার চলাকালে ২টি রেজিষ্ট্রেশন বিহীন মটরসাইকেল এবং অর্ধশত হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ করা হয়। অভিযানে আশাশুনি থানার এসআই নূরনবী, এএসআই কায়সারুল ইসলাম, কবির হোসেন অংশ নেন। পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত এ অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানাগেছে।

ময়মনসিংহে বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটির জেলা কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত

ময়মনসিংহে বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটির জেলা কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত

আশিকুজ্জামান মিজান ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ আজ (১৭ নভেম্বর) রোজঃ মঙ্গলবার দুপুর ১২ ঘটিকায় বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি এর ময়মনসিংহ জেলা কমিটি'র পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত। উক্ত অনুষ্ঠানটি ময়মনসিংহ নগরীর কৃষ্টপুর ঐতিয্যবাহী ডি এস কামিল মাদরাসার হল রুমে অনুষ্ঠিত হয় । 

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে পরিচিতি সভা উদ্ভোধন করেন ও উদ্ভোধক হিসাবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটির কেন্দ্রীয় সভাপতি মীর মোঃ সিরাজুল ইসলাম ।  তিনি বলেন, আগামী জানুয়ারীতে দেশের প্রতিটি জেলায় ঝমকালো ভাবে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করার আহবান জানান। উক্ত্য অনুষ্ঠান প্রত্যেক জেলা কমিটির সমন্বয়ে সাস্থ্য বিধি মেনে সুন্দর পরিবেশে অনুষ্ঠানটি করার নির্দেশনা জানান । 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি ড. মোঃ আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া । উনি বলেন, সাংবাদিকদের তথ্য নির্ভর ও সঠিক সংবাদ প্রকাশ করতে হবে । তারা অনেক সময় সংবাদ দিয়ে প্রশাসনকে সহযোগিতা করেন । উক্ত সংবাদের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করে থাকেন প্রশাসন । অনেক সময় সাংবাদিকরা বিভিন্ন দপ্তরে তথ্যর জন্য গেলে হয়রানির শিকার হয় । এর মধ্যে কমন একটি হয়রানি হচ্ছে চাঁদাবাজি মামলা । এ বিষয়ে সাংবাদিক সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে ।

বিষেশ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,  দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক, বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি'র ময়মনসিংহ জেলা কমিটির প্রধান উপদেষ্ঠা ড. মোঃ ইদ্রিছ খান । তিনি বলেন, এই সংগঠন সমগ্র বাংলাদেশে সারা জাগিয়েছে । যা তৃণমূল সাংবাদিকদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে ।

বিষেশ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি'র ময়মনসিংহ জেলা কমিটির উপদেষ্ঠা, ডঃ মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান । উনি বলেন, এই সংঘটনের মাধ্যমে সাংবাদিকরা বিভিন্ন সহযোগিতা পাবে ।  আর উক্ত অনুষ্ঠানটি পছন্দ হয়েছে । 


অনুষ্ঠানে বিষেশ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, গোলাম কিবরিয়া পলাশ । উনি বলেন, সংবাদ কর্মী জাতীর বিবেক। 


বিষেশ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি এর কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক, মোঃ মুশিদুল আলম ।

আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক, শফিকুল ইসলাম, জেলা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক, শামীম হোসাইন , আশিকুজ্জামান মিজান , আবুল হাসান রাতুল সহ জেলা কমিটির সকল সাংবাদিকবৃন্দ । 


অনুষ্ঠান শেষে অতিথি সহ জেলা কমিটির সকল সাংবাদিকদের কর্মদক্ষতার উপর  ক্রেস্ট বিতরণ করা হয়৷

আশাশুনি হাসপাতালের সেবার মান এগিয়ে নিয়েছেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ সুদেষ্ণা সরকার

 আশাশুনি হাসপাতালের সেবার মান এগিয়ে নিয়েছেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ সুদেষ্ণা সরকার

আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি, সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ    আশাশুনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সেবার মান অক্লান্ত পরিশ্রম করে আগের তুলনায় অনেকটাই এগিয়ে নিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সুদেষ্ণা সরকার। এ বছরের ২৫শে জানুয়ারী তিনি আশাশুনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদানের পর থেকে অদ্যবধি পর্যন্ত আশাশুনিবাসীর চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তিনি। জানাগেছে, তিনি যোগদান করেই প্রথমে হাসপাতালকে দৃষ্টিনন্দন করতে হাসপাতালের সামনে ফুল ও ফলের বাগান তৈরী করেন। হাসপাতাল হলরুমে মুজিববর্ষ উদযাপনসহ সকল জাতীয় দিবস গুরুত্ব সহকারে পালন করে যাচ্ছেন। তিনি আশাশুনিবাসীর সেবার ব্রত নিয়ে করোনা ও আম্পান এর সময় সাতক্ষীরা-৩ আসনের সংসদ সদস্যের সহযোগিতায় গ্রামে গ্রামে গিয়ে ক্যাম্প করে রোগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করেছেন। এছাড়াও তিনি হাসপাতালে স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্ণার, স্বাস্থ্য বার্তা প্রচারের জন্য টিভি স্থাপন, হাসপাতালের হলরুম সুসজ্জিতকরণ করেছেন। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ উদ্ধর্তনদের সাথে কথা বলে হাসপাতাল এরিয়ায় অন্ধকার দূরীকরণের লক্ষে স্ট্রীট লাইট স্থাপন, সঠিক নিরাপত্তা ও দ্বায়িত্বরতদের তদারকির জন্য সিসি ক্যামেরা স্থাপন করেছেন। সিজারিয়ান (অপারেশন) চালু, আল্ট্রাসনোগ্রাম, ইসিজি, এক্সরেসহ বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষার ব্যবস্থা করেছেন তিনি। করোনা মোকাবেলায় করোনা টিম শক্তিশালীকরণ ও প্রচার টিম গঠন এবং তাদের পর্যাপ্ত স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী নিশ্চিত করেছেন। নিজেই করোনা রোগীদের বাড়িতে গিয়ে খোঁজখবর নেওয়া, পর্যাপ্ত ঔষধ সরবরাহ ও ত্রাণের ব্যবস্থা করা এবং করোনামুক্ত হলে ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদানের ব্যবস্থা করেছেন। গ্রাম পর্যায়ে কমিউনিটি ক্লিনিক কার্যক্রমকে গতিশীল করতে নিজেই সরোজমিনে গিয়ে মনিটরিং করা, হাসপাতালের স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্ণার ও উঠান বৈঠকের মাধ্যমে স্বাস্থ্য বার্তা প্রচারের ব্যবস্থা করেছেন। পুষ্টি, নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতের লক্ষে বাজার মনিটরিং জোরদারকরণ, তামাকজাত দ্রব্য সংক্রান্ত ও ভেজাল বিরোধী অভিযান এবং পরিবেশ দূষণ তদারকী কওে যাচ্ছেন। আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় নিজেই গিয়ে মেডিকেল টিম গঠন ও প্রয়োজনীয় ঔষধ সরবরাহ করেছেন। হাসপাতালে আগত রোগীদের সুপেয় পানির ব্যবস্থা করার লক্ষে বিভিন্ন এনজিও এর মাধ্যমে পানির ট্যাংকি স্থাপন করেছেন। অপুষ্ট বাচ্চাদের জন্য আলাদা ওয়ার্ডের ব্যবস্থা করা, বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের খেঁাজখবর নেওয়া ও হাসপাতালের পুষ্টি কর্ণারের কার্যক্রম শক্তিশালী করেছেন। কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেন ইউনিট এবং নমুনা সংগ্রহ বুথ স্থাপন করেছেন। হাসপাতালের পরিষ্কার পরিছন্নতা নিশ্চিতকরণ, প্রবেশ পথে অত্যাধুনিক হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ হাসপাতাল ও মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন কার্যক্রম গতিশীল করতে নিরালস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তিনি। আশাশুনি হাসপাতালে সেবা নিতে আসা কয়েকজন রোগী জানান, বিগত সময়ের তুলনায় বর্তমানে এখানে সেবার মান বৃদ্ধি পেয়েছে। আমরা এখন নিজ উপজেলার হাসপাতাল থেকে সেবা কোন প্রকার হয়রানি ছাড়াই পেয়ে থাকি। এসময় আগত অনেক রোগী হাসপাতালের ডাক্তার, নার্সসহ স্টাফদের সেবায় সন্তুষ্ট প্রকাশ করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সুদেষ্ণা সরকার বলেন, চিকিৎসক হওয়ার শপথ যখন নিয়েছি তখন মানুষের সেবা দিয়েই যাব। আমি যোগদানের পর থেকে আজ পর্যন্ত আশাশুনিবাসী জরুরি প্রয়োজনে আমাকে পাশে পেয়েছে এবং ভবিষ্যতেও পাবেন। চিকিৎসকদের মানুষের পাশে থাকা খুব দরকার। আমরা যদি এখন পিছিয়ে যাই তাহলে আমরা আমাদের শপথ পূরণ করতে পারব না। আমরা যেহেতু ডাক্তার তাই আমাদের জীবনের শেষ সময় পর্যন্ত কাজ করে যাব। তিনি আরও বলেন, করোনা মোকাবেলায় বিদেশফেরত, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুরসহ দেশের বিভিন্নস্থান থেকে ফেরত লোকদের কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে ছুটেছি গ্রামে গ্রামে। করোনার সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকেই সব ধরনের রোগীদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করেছি। সীমিত সামথর্য থাকা সত্ত্বেও ফেরত দেয়নি কোনো রোগীকে। এসময় তিনি হাসপাতালকে আরও সুন্দরভাবে সাজাতে আশাশুনিবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন।

কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নামে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভা

কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নামে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে  প্রতিবাদ সভা



সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল” কেন্দ্রীয় কার্য-নির্বাহী কমিটির বিপ্লবী সভাপতি  সাইফুল আলম নিরব  এবং  সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক  সুলতান সালাউদ্দিন টুকু- সহ অসংখ্য যুবদল নেতা-কর্মিদের নামে অবৈধ ফ্যাসিবাদী স্বৈরাচারী,  আওয়ামীলীগ সরকার কর্তৃক ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা বানোয়াট মামলা দেয়ায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে -আজ ঝিনাইদহ জেলা যুবদল মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে  বিক্ষোভ ও সমাবেশ করেন। 

ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের তত্বাবধানে; শহরস্থ জেলা যুবদল, সদর থানা যুবদল ও সদর পৌর যুবদলের উদ্যোগে “বিক্ষোভ সমাবেশ আয়োজন করা হয়।উক্ত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেনঃ বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা মন্ডলির অন্যতম সদস্য, ঝিনাইদহ ২ আসন থেকে বারবার নির্বাচিত করায় সফল সংসদ সদস্য, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির সাবেক সফল সভাপতি,  আধুনিক ঝিনাইদহের রুপকার, বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জননেতা জনাব আলহাজ্ব মসিউর রহমান। 

সভাপতিত্ব করেনঃ ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের বিপ্লবী সভাপতি আহসান হাবীব রনক। বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন,জেলা কৃষক দলের আহবায়ক আনোয়ারুল ইসলাম বাদশা, সাবেক জেলা বিএনপির যগ্মসম্পাদক এম.  শাহজাহান আলী জেলা ছাত্রদলের  সভাপতি সোমেনুজ্জামান সমেন,  জেলা কৃষক দলের সদস্য সচিব লাভলুুর রহমান বাবলু, যুগ্মঅাহবায়ক মিজানুর রহমান মাষ্টার, সদর থানা যুবদলের বিপ্লবী আহবায়ক আশরাফুল ইসলাম আশরাফ, ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি জিল্লুর রহমান, জাহীদ বিশ্বাস, ইনছার আলী, মিজানুর রহমান জেলা যুবদলের যুগ্ম-সম্পাদক শাহ্ মোঃ ইমরান,  সহসাংগঠনিক সম্পাদক আমিরুল ইসলাম  জেলা যুবদলের তথ্য ও যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সাইদুল ইসলাম, সদর পৌর যুবদলের  যুগ্ম-আহবায়ক মোঃ রিপন হোসেন, সদর থানা যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক মোঃ সবুজ হোসেন,, জেলা যুবদলের অন্যতম সদস্য মোঃ রাকিবুল ইসলাম, মোঃ মোশাররফ হোসেন সহ শহরস্থ জেলা, সদর থানা, সদর পৌর, ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ড যুবদলের প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। সঞ্চালনা করেনঃ ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের সহ-দফতর সম্পাদক মোঃ আক্তারুজ্জামান আকতার।

মোংলা বন্দরে আউটার বারে ড্রেজিং করা নতুন চ্যানেল দিয়ে জাহাজ চলাচল শুরু

মোংলা বন্দরে আউটার বারে ড্রেজিং করা নতুন চ্যানেল দিয়ে জাহাজ চলাচল শুরু


মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃবর্তমান সরকার ও বন্দর কর্তৃপক্ষের নানামুখী যুগান্তকারী পদক্ষেপের ফলে মোংলা এখন ক্রমশই উন্নতির দিকে ধাবিত হচ্ছে। উন্নয়নের এই ধারাবাহিকতায় মোংলা বন্দরের আউটার বারে ড্রেজিংকৃত নতুন চ্যানেল দিয়ে জাহাজ চলাচল শুরু হয়েছে। মোংলা বন্দরের এ্যাংকোরেজ এলাকায় ১০.৫ মিটার ড্রাফটের জাহাজ হ্যান্ডলিং এর উদ্দেশ্যে “মোংলা বন্দর চ্যানেলের আউটার বারে ড্রেজিং” শীর্ষক প্রকল্পটি মোট ৭১২ কোটি ৫০ লাখ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে একনেক সভায় অনুমোদিত হয়। প্রকল্প অনুমোদনের পর আন্তর্জাতিকদরপত্র আহবান করে হংকং রিভার ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানী লিমিটেড এবং চায়না সিভিল ইঞ্জি নিয়ারিং কনষ্ট্রাকশন কর্পোরেশনের সাথে ২০১৮ সালের ১৩ ডিসেম্বর চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।  চুক্তি স্বাক্ষরের পর হতে ঠিকাদার ড্রেজিং শুরু করে। ড্রেজিং এলাকাটি দুইটি সেকশনে বিভক্ত যার মধ্যে একটি সেকশন হিরণ পয়েন্ট হতে প্রায় ২০ কিলোমিটার দক্ষিণে উন্মূক্ত সাগরের মধ্যে এবং অপর সেকশন হিরণ পয়েন্ট সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত। সমুদ্রের মধ্যের সেকশনটি সম্পূর্ণ এবং হিরণ পয়েন্ট সংলগ্ন সেকশনটির প্রায় ৮৫% ড্রেজিং সমাপ্ত হওয়ায় ফেয়ারওয়ে বয়া হতে হিরণ পয়েন্ট পর্যন্ত সম্পূর্ণ চ্যানেলে ৮.৫ মিটার সিডি গভীরতা সম্পন্ন চ্যানেল সৃষ্টি হয়েছে। উল্লেখ্য এই চ্যানেলটি বর্তমানে ব্যবহৃত চ্যানেলের পশ্চিমে বঙ্গবন্ধু চরের পাশ দিয়ে অবস্থিত। বর্তমানে বিদ্যমান চ্যানেলে ফেয়ারওয়ে বয়া হতে হিরণ পয়েন্ট পর্যন্ত কিছু স্থানে সর্বনিম্ন ৬.৫ মিটার সিডি গভীরতা থাকায় বেশি ড্রাফটের জাহাজ বন্দরে আসতে পারত না। অথচ হিরণ পয়েন্টের পর হতে হারবাড়িয়া এ্যাংকোরেজ পর্যন্ত ৮.৫ মিটার সিডি এর অধিক গভীরতা রয়েছে এবং কিছু এ্যাংকোরেজে ১০.৫ মিটারের অধিক ড্রাফটের জাহাজ বার্থিং করার জন্য প্রয়োজনীয় গভীরতা আছে। শুধুমাত্র আউটার বারের সীমাবদ্ধতার জন্য

বন্দরের এ্যাংকোরেজে বেশি ড্রাফটের জাহাজ আনা যেত না। এছাড়া বর্তমান চ্যানেলটি বেশ আঁকাবাকা। আউটার বারে ৮.৫ মিটার সিডি গভীরতায় ড্রেজিং এর ফলে জোয়ারের সময় বন্দরে এখন ১০.৫ মি. ড্রাফটের জাহাজ আসার সুবিধা সৃষ্টি হয়েছে। নতুন ড্রেজিংকৃত চ্যানেলে নেভিগেশন বয়া স্থাপন করার পর মঙ্গলবার ১৭ নভেম্বর থেকে জাহাজ চলাচল শুরু হয়েছে। নতুন চ্যানেলটি অপেক্ষাকৃত সোজা হওয়ায় সেখান দিয়ে বন্দরে জাহাজ আসতে সময় কম লাগছে এবং জাহাজ নিরাপদে আসতে পারছে। এর ফলে বন্দরে জাহাজের সংখ্যা ও রাজস্ব অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে। এ পর্যন্ত প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৯৫% এবং অবশিষ্ট কাজ প্রকল্পের মেয়াদ চলতি বছরের ডিসেম্বরে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। 

জানতে চাইলে মোংলা বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজাহান বলেন, বন্দরের আউটার বারে ড্রেজিংয়ের কারনে অনায়াসেই বন্দরে বেশি ড্রাফটের জাহাজ আসতে পারবে। বন্দরের উন্নয়নে বাকী মেগা প্রকল্পের কাজগুলোও দ্রত শেষ হবে বলে জানান তিনি। আউটার বারে ড্রেজিংয়ের কারনে মোংলা বন্দর ভিশন - ২০২১ বাস্তবায়নে অনেক দূর অগ্রসর হয়েছে বলে এ প্রতিবেদককে জানিয়েছে বন্দর ব্যবহারকারীরা।

কুলাউড়ায় কবিরাজি গ্রামে ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

 কুলাউড়ায়  কবিরাজি গ্রামে ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত




মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,  কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়া উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নে নিঃস্ব সহায়ক সংস্থার সার্বিক সহযোগিতায় দিন ব্যাপী ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।১৭ নভেম্বর  মঙ্গলবার সকাল  ১০টায় কবিরাজি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রাউৎগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল জামালের সভাপতিত্বে ও সংস্থার কো- অর্ডিনেটর ফজলে মাওলা চৌধুরী ফুয়াদের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক রেজিস্ট্রার জামিল আহমদ চৌধুরী।বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন সিলেট মহিলা সরকারী কলেজের সাবেক ভাইস প্রিন্সিপাল ফাইমা জিন্নুরায়েন,কুলাউড়া উপজেলা বিআরডিবির ভাইস চেয়ারম্যান সাংবাদিক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, কবিরাজি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পারভেজ হোসেন ভূইয়া। সাবেক ইউপি সদস্য সৈয়দ আব্বাছ আলী।

স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব পালন করেন সৈয়দ ইশতিয়াক আহমদ, সিদ্দিকুর রহমান, রাহিদুর রহমান, অলিউর রহমান, মাহিনুল ইসলাম, সৈয়দ আবুল বাশার, ছাব্বির আহমদ, সৈয়দ জাকির হোসেন,মিন্টু দাস প্রমুখপ্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন দীর্ঘদিন যাবৎ আমরা এলাকায় ফ্রি মেডিক্যাল সেবা ও চক্ষু সেবা দিয়ে আসছি এবং এলাকার অসহায় মানুষের কল্যাণে আগামীতে ও আমাদের এই সংগঠনের কার্যক্রম অভ্যাহত থাকবে।উল্লেখ্য, ১২০ জন অসহায় রুগীকে ফ্রি চিকিৎসা সেবা ও ঔষুধ প্রদান করা হয়।

চট্টগ্রামে সিটিজি ক্রাইম টিভির ৮ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন

 চট্টগ্রামে সিটিজি ক্রাইম টিভির ৮ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন

বেলাল উদ্দিন সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টারঃচট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রধান আনিছুর রহমান হীরুর সভাপতিত্বে এবং সাংবাদিক আবুল কালামের সঞ্চালনায় সিটিজি ক্রাইম টিভির ৮ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী সম্পন্ন হয় আগ্রাবাদ হোটেল জামানের ২য় তলায় সম্পন্ন হয়।এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ২ জালালাবাদ ওয়ার্ডের শেখ হাসিনার মনোনীত কাউন্সিলর পদপার্থী মোহাম্মদ ইব্রাহিম। প্রধান মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক জাগ্রত প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক সাংবাদিক এস ডি সুমন,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হালিশহর রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আবুল কালাম,হালিশহর রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন এর সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক নাছির উদ্দীন,সিটিজি ক্রাইম টিভির চট্টগ্রাম প্রতিনিধি আতিক,আবদুল করিম,ওয়াজেদ, দিগন্ত, আরিফ, সেলিম,এনাম,জীলানি,নিজাম উদ্দিন, সাংবাদিক  বেলাল উদ্দিন , রকিব সহ আরো অন্যনা নেতৃবৃন্দরা।

সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা নির্যাতনের প্রতিবাদে  মানববন্ধন


সেলিম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টারঃদৈনিক সকালের সময়’র সম্পাদকসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে অপকর্মে দন্ডপ্রাপ্ত পাপিয়ার সহযোগী মোস্তারী মোরশেদ স্মৃতির উদ্দশ্য প্রণোদিত পিটিশনের প্রতিবাদে পটিয়ায় ১৭ নভেম্বর  মঙ্গলবার সকাল ১১টায়  পটিয়ার থানার মোড়ে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। রিভিউ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার পটিয়া উপজেলার সভাপতি এম নাছির উদ্দীনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও দক্ষিণ জেলার আহ্বায়ক এবং সাবেক পৌর মেয়র মুক্তিযোদ্ধা শামশুল আলম মাস্টার, প্রধান বক্তা ছিলেন দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও পটিয়া পৌরসভার আওয়ামী লীগ দলীয় সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী আইয়ুব বাবুল, বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরম দক্ষিণ জেলা সভাপতি ও পটিয়া প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাকিম রানা, পটিয়া আইন কলেজের সাধারণ সম্পাদক ও পটিয়া আইনজীবী সমিতির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট খুরশীদ আলম, বীরমুক্তিযোদ্ধা গোলাম কিবরিয়া বাবুল, পটিয়া প্রতিভা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান আবুল কালাম লিটন, পটিয়া প্রেস ক্লাব সহ সভাপতি এটিএম তোহা, 


পটিয়া পৌরসভা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমদ, উপজেলা এলডিপির সাধারণ সম্পাদক ও রিভিউ অর্থ সম্পাদক আইয়ুব আলী, রিভিউ সহ সভাপতি রাশেদ কবির আরমান, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবু তাহের চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল মোতালেব মনু মেম্বার, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মনির আহম্মদ, সদস্য মোস্তাফা কামাল, দক্ষিণ জেলা ছাত্রসেনার সভাপতি নুরের রহমান রণি, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য ও দৈনিক নয়াবাংলা বার্তা সম্পাদক জাবেদুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও ছনহরা আওয়ামী লীগ দলীয় সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী ওসমান আলমদার, হালকা মোটর যান চালক ইউনিয়ন পটিয়ার সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ, পটিয়া প্রেস ক্লাব প্রচার সম্পাদক কামরুল ইসলাম, দৈনিক আমাদের নতুন সময় প্রতিনিধি গিয়াস উদ্দীন, চন্দনাইশ সাংবাদিক ঐক্য ফোরাম সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রুবেল, দৈনিক জবাবদীহি চন্দনাইশ প্রতিনিধি ফারুকুল ইসলাম হৃদয়, খবর বাংলা-২৪ স্টাফ রিপোর্টার হেলাল উদ্দীন নিরব, পটিয়া কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি এনামুর রশীদ,  ছাত্র নেতা সাঈদ মোকাররম, নীড় ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম রিয়াদ, উপজেলা বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা সাধারণ সম্পাদক মোবাশে^র আলম, দপ্তর সম্পাদক রবিউল হোসেন শাকিল, শিশু কিশোর মেলার মীর কাশেম মিরু, ছাত্র নেতা মোহাম্মদ তানভীর, মহিউদ্দীন, আকবর হোসেন প্রমুখ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা শামশুল আলম মাস্টার বলেন, সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা হামলা করে অপরাধিরা রেহায় পাবে না। নিজের অপরাধ ঢাকতে কেউ যদি চালাকি করে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা হামলা করে কলম বন্ধ করার অপচেষ্ঠা করেন তাহলে তার পরিনতি শুভ হবে না। অবিলম্বে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে সাংবাদিক সমাজের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী আইয়ুব বাবুল বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিক বান্ধব নেত্রী,পাপিয়ার মত কিছু অপরাধি ও তার সহযোগিরা অপকর্ম করে বেড়াবে সাংবাদিকেরা সংবাদ প্রকাশ করলে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করবে এটা কোন অবস্থাতে মেনে নেয়া যায় না। পাপিয়ার অপরাধের কারণে শাস্তি হয়েছে সেখানে তার সহযোগি কিভাবে মামলা করে এই সাহস কে দিয়েছে? সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা করে সরকারকে বিব্রত করার অপচেষ্টা করছেন চক্রটি। দ্রুত মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

ফিরে আসা শেখ মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, ব্যুরো চীফ মাগুরা

ফিরে আসা শেখ মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, ব্যুরো চীফ মাগুরা

খুঁজে ফিরি যত অন্ধকার আমি হারিয়ে যাব বলে, 

আলো এসে পড়ে দুচোখ জুড়ে 

পথ দেখাবে বলে। 

পথ ছেড়ে যত অপথ, বিপথ ভুল পথের 

পথে হেঁটে, 

অলি গলি ঝাড় দূস্তর অপাড় 

বিপথের রথে কেটে। 

পথ খুঁজেছি পথ হারিয়েও

কত পথ করে শেষ, 

সঙ্গী ভেবেছি হারানো পথকেই

যবনিকায় নিঃশেষ। 

আলো ভেবে সেই অন্ধকারেই 

ঘুরেছি জগৎ ভর,

ঘুরে ফিরে শুধু নিজেকই পেঁয়েছি 

অগাধ নিরন্তর। 

তবুও খুঁজেছি মায়ের কোল আর

দুধ গন্ধের সুধা, 

পিতার কাঁধের নরম আস্তর

মন মানবের ক্ষুধা।

দেখেছি আলোর আলোক ঝলকানি

মৌন আলোর মিছিল, 

অন্ধকারের আলোই জগত

দীপ্ত সুপ্ত নিখিল।

মওলানা ভাসানীর মতো করে দেশকে গড়তে হবে -শান্তা ফারজানা

 মওলানা ভাসানীর মতো করে দেশকে গড়তে হবে -শান্তা ফারজানা

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ সেভ দ্য রোড'র মহাসচিব শান্তা ফারজানা বলেছেন, মওলানা ভাসানীর মতো করে দেশকে গড়তে হবে। টাঙ্গাইলের সন্তোষে অদ্য সকাল সাড়ে ১০ টায় মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। এসময় তিনি আরো বলেন, মওলানা ভাসানী যেভাবে দেশকে গড়তে চেয়েছিলেন সেভাবে গড়তে হলে দুর্নীতি থামাতে হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন সেভ দ্য রোড'র প্রতিষ্ঠাতা মোমিন মেহেদী, ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব রানা, মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণসংযোগ কর্মকর্তা শামসুল আলম শিবলী প্রমুখ।


নড়াইলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-১, আহত -১

 নড়াইলে সড়ক দুর্ঘটনায়  নিহত-১, আহত -১

মো: আজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃনড়াইলের নড়াগাতী থানার তেলিডাংগা নামক স্থানে  মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে চালক কাঠাদুরা গ্রামের মো: হেমায়েত মিয়ার ছেলে মো: রবিউল ইসলাম (১৭)নামে নিহত হয়ছেন। ঐ একই গ্রামের আয়ুব মোল্লার ছেলে মো: আকাইদ (১৬) আহত হয়েছে।  স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ১৭/১১/২০২০ তারিখ : মঙ্গলবার বিকাল ৩ টা ৩০ মিনিটের সময় ইসলামপুর থেকে মহাজন বাজারে যাওয়ার পথে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

এ সময় স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: মো: বেলাল হোসেন রবিউল ইসলাম কে মৃত ঘোষণা করেন।ও আহত অাকাইদ কে উন্নত চিকিৎসার জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।এই ঘটনায় নড়াগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি রোকসানা খাতুন বলেন ঘটনাটি এখনো আমি শুনি নাই, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আশাশুনিতে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তার স্ত্রীর দাফন সম্পন্ন

 আশাশুনিতে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তার স্ত্রীর দাফন সম্পন্ন



আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ: আশাশুনিতে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মোঃ আসাফুর রহমান টুকুর স্ত্রী শামসুন্নাহার সিম্পির দাফন সম্পন্ন হয়েছে। আশাশুনি উপজেলা সদরে মৃত মুনসুর সরদারের পুত্র অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা আসাফুর রহমান টুকুর স্ত্রী শামসুন্নাহার সিম্পি(৪৮) সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। মৃত্যুকালে তিনি স্বামী, দুই পুত্র ও অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন। মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় মরহুমার জানাজা নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।মরহুমার জানাজা নামাজে উপস্থিত ছিলেন আশাশুনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সদর ইউপি চেয়ারম্যান স,ম সেলিম রেজা মিলন, আশাশুনি সরকারি কলেজের সাবেক উপাধ্যক্ষ আব্দুস সবুর, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মাহাতাব উদ্দিন,আবুল কাশেম, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক জেলা পরিষদ সদস্য মহিতুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি ঢালি শামসুল আলম,সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক আসিফ সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি তবিবুর রহমান তৈবার,উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আসমাউল হোসাইন সহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মুসল্লিবৃন্দ। নামাজে জানাযায় ইমামতি করেন থানা সদর জামে মসজিদের ইমাম প্রভাষক বাকি বিল্লাহ। দাফন শেষে মরহুমার জন্য দোয়া কামনা করে মোনাজাত করা হয়। আগামী শুক্রবার জুম্মাবাদ মরহুমার পরিবারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন মসজিদে দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। যশোরের কেশবপুর উপজেলার মঙ্গলকোট শ্বশুরবাড়ি থেকে নিজ বাড়ি আশাশুনিতে আসার সময় গতকাল সন্ধ্যায় সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা মহাসড়কের ভৈরব নগরের শাকদহ ব্রিজে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে শামসুন্নাহার সিম্পি ঘটনাস্থলে মৃত্যুবরণ করেন এবং মোটরসাইকেলের চালক নিহতের স্বামী অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা আসাফুর রহমান টুকু আহত হন।

প্রধানমন্ত্রীর চাচী শেখ রাজিয়ার মৃত্যুতে বগুড়ায় আ.লীগের শোক

প্রধানমন্ত্রীর চাচী শেখ রাজিয়ার মৃত্যুতে বগুড়ায় আ.লীগের শোক



মোঃ সবুজ মিয়া,বগুড়া প্রতিনিধিঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ভাই শহীদ শেখ আবু নাসেরের সহধর্মীনি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার চাচি, মাননীয় সাংসদ শেখ হেলাল উদ্দিন ও শেখ সালাউদ্দিন জুয়েলের মাতা এবং সাংসদ শেখ তন্ময়ের দাদী মোছাঃ রাজিয়া নাসের (৮৬) সোমবার রাত ৮টায় রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বার্ধক্যজনিত কারণে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তিনি ৫ ছেলে ও নাতি-নাতনীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে শোক জানিয়ে বিবৃতি প্রদান করেছেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু ও সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু। নেতৃবৃন্দ মরহুমার রুহের মাগফিরাত ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

পটিয়ায় বিএনপি'র মেয়র প্রার্থী যুবদল নেতা শাহজাহান চৌধুরী সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়

 পটিয়ায় বিএনপি'র মেয়র প্রার্থী যুবদল নেতা শাহজাহান চৌধুরী সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়



সেলিম চৌধুরী,স্টাফ রিপোর্টারঃ আসন্ন পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির সমর্থিত দক্ষিণ জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ   শাহজাহান চৌধুরী পটিয়ার সাংবাদিকের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন। ১৭ নবেম্বর (সোমবার) সকালে স্থানীয় একটি রেস্তোরায় মতবিনিময় করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম  দক্ষিণ জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি রবিউল হোসেন বাদশা, জেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক আল রায়হান সোহেল, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, আলী আকবর, পটিয়া পৌরসভা বিএনপির সাবেক প্রচার সম্পাদক মোসলেম উদ্দিন, সাবেক সহ-সভাপতি খায়ের আহমদ, জেলা যুবদলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম পটল, সুজন মেম্বার, জেলা যুবদলের ক্রীড়া সম্পাদক আবদুল খালেক, সহ- দপ্তর সম্পাদক মামুন, পটিয়া  পৌরসভা যুবদল নেতা এসএম রেজা রিপন, পটিয়া উপজেলা যুবদল নেতা সাজ্জাদুল আলম আলভী, সাইফুল ইসলাম মামুন, পৌরসভা যুবদল নেতা রাকিব হাসান।মতবিনিময়কালে মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ শাহজাহান চৌধুরী বলেন, তাদের পারিবারিক ঐতিহ্য রয়েছে। তার দাদা মরহুম আমজু মিয়া সওদাগর ও পিতা আবু মুছা প্রকাশ বালি সওদাগর পটিয়া ১৪নং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। যার অর্ধেক পটিয়া বর্তমানে পটিয়া পৌরসভার আওতায়।       

আগামী পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির সমর্থনে ধানের শীর্ষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করতে আগ্রহী। বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও বিএনপির চেয়ারপাসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি তরান্বিত করতে আগামী পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করছে। সে নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী হিসেবে তিনি (শাহজাহান চৌধুরী) পটিয়া থেকে নির্বাচন করবেন। দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতির পাশাপাশি ক্রীড়া সংগঠনের সঙ্গে সম্পৃক্ত। তাকে মনোনয়ন দিলে স্বস্তরের মানুষ বিজয়ের ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখবে। শাহজাহান চৌধুরী বলেন ১৯৯০ সাল থেকে ছাএদলের রাজনীতির সাথে যুক্তছিলাম এর পরে একাধিকবার পটিয়া পৌরসভা যুবদলের সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি এবং আহবায়ক এর দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি গনতান্ত্রিক আন্দোলন  সংগ্রামে রাজপথে ছিলাম আমার দৃঢ় বিশ্বাস দল আমাকে সবদিক বিবেচনা করে মনোনয়ন দিলে আমি পটিয়া পৌরসভার মেয়র পদটি উপহার দিতে পারবো। তিনি আরোও বলেন পরিচ্ছন্ন সুন্দর একটি আধুনিক মডেল পৌরসভা গড়ে তুলতে এবং মানুষের সেবা নিশ্চিত করতে দলের মনোনয়ন ও সকলের সহযোগিতা কামনা করেন এবং তিনি বিএনপি হাইকমান্ডের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

কিশোরগঞ্জে হাবিবুল্লাহর দখলে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়

কিশোরগঞ্জে হাবিবুল্লাহর দখলে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়

মোঃ লাতিফুল আজম,কিশোরগঞ্জ নীলফামারী প্রতিনিধি:নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার একাডেমিক সুপার ভাইজার হাবিবুল্লাহ ইএমআইএস এর পাসওয়ার্ড নিজে সংরক্ষণ করে উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জিম্মি করে রেখেছে।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সূত্রে জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার হাবিবুল্লাহ ২০২০ সালের মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) নতুন করে সাভার্র উন্নয়ন করে সার্বজনীন ভাবে একটি পাসওয়ার্ড তৈরী করে ছেড়ে দেয়।সেই পাসওয়ার্ড নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানগণ উক্ত পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে নিজে সংরক্ষণ করে ব্যবহার করবেন। কিন্তু সেই পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করার আগে একাডেমিক সুপার ভাইজার হাবিবুল্লাহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে নিজের সংরক্ষণে রাখেন। যাহা সম্পূর্ণ রূপে অবৈধ ও শিক্ষা নীতিমালার 

পরিপন্থি।কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নতুন করে মান্থলি পেমেন্ট অর্ডার (এমপিও) ভূক্ত শিক্ষক কর্মচারী অথবা টাইম স্কেলের জন্য ফাইল প্রেরণের কাজ তিনি নিজেই বাগিয়ে নিয়ে নেন এবং এর মাধ্যমে তিনি মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেন। আবার কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তাদের নিজস্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ফাইল প্রেরণ করলে একাডেমিক সুপার ভাইজার 

ফাইল প্রেরণের বিভিন্ন ভুল বের করে তা আটকিয়ে দেন। আবার সেই ফাইল তিনি একই ভাবে প্রেরণ করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেন।নাম প্রকাশ না করার শর্তে কিশোরীগঞ্জ বহুমুখী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক বলেন, আমাদের বিদ্যালয়ের দু’জন শিক্ষকের টাইম স্কেল ফাইল পাঠানোর জন্য ৫ হাজার টাকা নেয় এবং আরও টাকা দাবী করেন। মুশরুত পানিয়াল পুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষিকার উচ্চতর স্কেলের ফাইল প্রেরণের জন্য ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে ২(দুই) হাজার টাকা নেন এবং কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে দাড়িয়ে থেকে ওই শিক্ষিকাকে ফোন করে আরও টাকা দাবী করে ফাইল প্রেরণ করেন। সেই ফাইল প্রেরণ করা হলে কয়েকদিনের মাথায় আবার ফাইল ফেরত পাঠান মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস।

এ ব্যাপারে উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার হাবিবুল্লাহ’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন,অনেক প্রতিষ্ঠানের আইসিটি শিক্ষকই অনলাইনের মাধ্যমে এমপিওর ফাইল প্রেরণ করতে পারে না। তারা আমাকে ফাইল প্রেরণের জন্য আমার পারিশ্রমিক বাবদ খুশি হয়ে কিছু টাকা দিয়ে থাকেন।উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এ টি এম নূরুল আমিন শাহ বলেন,তিনি উপজেলার কোন প্রতিষ্ঠানের পাসওয়ার্ড নিয়ন্ত্রন করতে পারে না। তবে কিছু প্রতিষ্ঠান প্রধানতাদের ফাইল পাঠানোর জন্য দোকানে কাজ করে থাকেন। আর তাদের পাসওয়ার্ড যেন ব্যবসায়ীদের কাছে না থাকে তাদের পাসওয়ার্ড একাডেমিক সুপার ভাইজার পরিবর্তন করে দিয়ে দেন।

আনোয়ারায় ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকগুলোতে ইউএনও,র অভিযান,২টি প্রতিষ্ঠানকে সিলগলা

আনোয়ারায় ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকগুলোতে ইউএনও,র অভিযান,২টি প্রতিষ্ঠানকে সিলগলা

মোঃ আরিফুল ইসলাম,চট্টগ্রাম,প্রতিনিধিঃআনোয়ারা উপজেলায় অবস্থিত অনুমোদনহীন ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকগুলোতে অভিযান চালিয়ে দুইটি প্রতিষ্ঠানকে সিলগলা হয়।

(১৭) নভেম্বর মঙ্গলবার সকালে থেকে এই ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালনা করেন আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ জুবায়ের আহমেদ। উক্ত অভিযানে বটতলী আইডিয়াল ক্লিনিক ও জনসেবা ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে যাবতীয় অনুমোদন কাগজপত্র দেখাতে না পারায় সিলগলা করে দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ জুবায়ের আহমেদ জানান,আমরা আনোয়ারা উপজেলায় কয়েকটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকে অভিযান চালিয়েছি,যেখানে নেই কোন প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত নার্স,নেই কোন টেকনোশিয়ান,নেই কোন প্রতিষ্ঠানিক সরকারি অনুমোদন!এবং চিকিৎসার পর্যাপ্ত পরিবেশ না থাকায় একটি ক্লিনিক ও একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগলা করে দিয়েছি,এস এম এ পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার অভিযান করতে গেলে তালাবদ্ধ পাওয়া যাই এবং বাকি আরো অনুমোদনহীন প্রতিষ্ঠানগুলোতে পর্যায়ক্রমে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ আবু জাহিদ মোহাম্মদ সাইফুদ্দীন সহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর মেডিকেল টিম।

দৌলতখানের মাটিতে চির নিদ্রায় শায়িত হলেন প্রিয় ওস্তাদ মাওঃ সিরাজুল ইসলাম

দৌলতখানের মাটিতে চির নিদ্রায় শায়িত হলেন প্রিয় ওস্তাদ মাওঃ সিরাজুল ইসলাম

 


মোঃ আওলাদ হোসেন, জেলা প্রতিনিধি,ভোলা (দৌলতখান)সকল প্রানীকেই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহন করতে হবে,(সূরা আল ইমরান)এটা অমোঘ সত্য একটি বচন।ভোলার দৌলতখান উপজেলার হাজিপুর ইসলামিয়া সিনিয়র ফাযিল(ডিগ্রী)  মাদ্রাসার সহকারী মৌলবী আলহাজ্ব হযরত মাওঃ সিরাজুল ইসলাম সাহেবকে আজ মঙ্গলবার সকাল ১০.০০ ঘটিকার সময় হাজিপুর ইসলামিয়া সিনিয়র ফাযিল মাদ্রাসার কবরস্থানে সমাধিস্থ করা হয়।মাওঃ সিরাজুল ইসলাম কয়েকমাস ধরে অসুস্থ ছিলেন।স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন, মোটামুটি সুস্থ হয়েছিলেন। হঠাৎ রবিবার স্বাস্থ্যের অবনতি হলে,পারিবারিক সিদ্ধান্তে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকাতে নেয়া হয়।ঢাকাতে নেয়ার পর চিকিৎসা না নিতেই চলে যান না ফেরার দেশে।ইন্না-লিল্লাহী অইন্নাইলাহীর রাজিউন!  মৃত্যু কালে হুজুরের বয়স হয়েছিল ৬২ বছর।হুজুর তিন ছেলে, এক মেয়ে ও স্ত্রী রেখে গেছে। বড় ছেলে আবদুল্লাহ আল ফুয়াদ জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কেমিস্ট্রি তে অনার্স মাস্টার্স শেষ করেছেন,মেঝো ছেলে মাহমুদুল হাসান জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন অনুষদের অনার্স ৪র্থ বর্ষের ফল প্রার্থী, ছোট ছেলে সাদমান সাকিন দৌলতখান সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী,মেয়ে ৫ম শ্রেণিতে পড়াশুনা করে আর স্ত্রী গৃহিণী। 

হুজুরের শত শত ছাত্র, অনুসারী, ওস্তাদ,সহকর্মী ও এলাকার লোকজনের অংশগ্রহণে জানাজা ও দাফনের কাজ সম্পন্ন হয়।আল্লাহ পাক হুজুরকে জান্নাতের উচ্চ মাক্বাম দান করুন সাথে সাথে এই প্রার্থনা করছি মহান আল্লাহ তাঁর পরিবারকে ধৈর্য ধারন করার তৌফিক দান করুন, আমিন!

কয়রায় হিউম্যান ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে প্রতিবন্ধী আয়েশাকে হুইল চেয়ার প্রদান

কয়রায় হিউম্যান ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে প্রতিবন্ধী আয়েশাকে হুইল চেয়ার প্রদান



কয়রা ( খুলনা) প্রতিনিধিঃ খুলনা জেলার কয়রা উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নের কালনা গ্রামের  । আয়েশা জন্ম থেকে শারীরিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে পারে না। সে দুই পায়ের হাঁটুর উপর ভর করে চলাফেরা করে, যেটা খুবই কষ্টসাধ্য। মা মারা যাওয়ায় বৃদ্ধ নানা-নানির বাড়িতে তার বসবাস, যাদের আর্থিক অবস্থা একেবারেই অস্বচ্ছল।

এমন  পরিস্থিতিতে তার পাশে দাঁড়িয়েছে মানবিক স্বেচ্ছাসেবী  সংগঠন হিউম্যান ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন (এইচ.ডব্লিউ.এফ)। যেটা মানবিক কাজ করে চলেছে সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি ও শ্যামনগর উপজেলা এবং খুলনা জেলার কয়রা উপজেলাতে। এখানে কাজ করতে গিয়ে দেখা মেলে প্রতিবন্ধী আয়েশার।আয়েশার এই করুন পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে তার জন্য একটা হুইলচেয়ারের ব্যবস্থা করেছে মানবিক এই সংগঠনটি।  আজ তার কাছে হুইল চেয়ার তুলে দেওয়া হয়। 

এ সময়ে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি প্রভাষক ডক্টর মোঃ মিজানুর রহমান।এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লালুয়া বাগালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান  শিক্ষক  জনাব মোহাম্মদ শাহবাজ হোসেন। এছাড়া অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন        কালনা আমিনিয়া ফাজিল মাদ্রাসা, কয়রা, খুলনা এর সহকারী শিক্ষক জনাব নুরুল ইসলাম বাবলু, সাংবাদিক ফরহাদ হোসেন। 

এসময়ে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা এ আইসিডির সদস্য আশিকুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।সংগঠনের পরিচালক মোহাম্মদ আবু সাঈদ বলেন, " আমরা মানবিক ডোনারের সহযোগিতায় এই কার্যক্রম করেছি। সকল মানবিক কাজে সকলের সহযোগিতা কামনা করি।

চলাচলের পাথেয় স্বরুপ একটা হুইলচেয়ার পেয়ে আয়েশার পরিবার খুব খুশি। তারা মানবিক এই সংগঠনের দীর্ঘায়ু কামনা করে।

দিনাজপুরের বিরলে কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্বর্ধনা

 দিনাজপুরের বিরলে কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্বর্ধনা



মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ দিনাজপুরের বিরল উপজেলার কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্বর্ধনা প্রদান করেছেন বিরল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন।

এ উপলক্ষে  বিরল সরকারী কলেজ অডিটরিয়ামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিরল পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব সবুজার সিদ্দিক সাগর, বিশেষ অতিথি ছিলেন, বিরল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তৈয়ব আলী, কাল্ব ‘ক’ অঞ্চলের ডিরেক্টর একরামুল হক, কাল্ব-এর দিনাজপুর জেলা ব্যবস্থাপক খন্দকার ফারুক আহমেদ ও দিনাজপুর ক্লাস্টার প্রতিনিধি পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, বিরল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান। অনুষ্ঠানে ২৭ জন কৃতি শিক্ষার্থীকে সন্মাননা ক্রেষ্ট ও আর্থিক সহায়তা প্রদাণ করা হয়। 

শেখ রাজিয়া নাসেরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

 শেখ রাজিয়া নাসেরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক


তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; ডেষ্ক রিপোর্টঃপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চাচি ও সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দীনের মা শেখ রাজিয়া নাসেরের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পৃথক শোক বার্তায় শোক জানান রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী।বঙ্গভবন প্রেস উইং জানায়, শোক বার্তায় রাষ্ট্রপতি মরহুমা রাজিয়া নাসেরের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন ও তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং জানায়, জাতির পিতার একমাত্র ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ শেখ আবু নাসের এর সহধর্মিনী, সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন ও সংসদ সদস্য শেখ সালাউদ্দিন জুয়েল এর মা এবং সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়- এর দাদী শেখ রাজিয়া নাসের- এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শোক বার্তায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাধীনতা ও দেশ বিরোধী চক্র ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাতে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ নাসেরকেও নৃশংসভাবে হত্যার পর তার পরিবারকে যে চরম নিরাপত্তাহীনতা, হয়রানি ও উদ্বেগের  মধ্য দিয়ে দিন কাটাতে হয় সেই স্মৃতিচারণ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৮১ সালে দেশে ফেরার পর, সব সময় মায়ের ভালবাসা দিয়ে তিনি পাশে থেকে আমাকে সাহস ও প্রেরণা যুগিয়েছেন।প্রধানমন্ত্রী মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

সোমবার (১৬ নভেম্বর) রাত ৯টায় রাজধানী ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেখ রাজিয়া নাসের ইন্তেকাল করেন।

ঝিনাইদহে দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

 ঝিনাইদহে দুই সাংবাদিকের  বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃঝিনাইদহে দুই সাংবাদিকসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে কালীগঞ্জে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

দৈনিক নবচিত্র পত্রিকার বার্তা প্রধান জেলার সিনিয়র সাংবাদিক আসিফ কাজল ও দৈনিক যুগান্তরের কালীগঞ্জ প্রতিনিধি শাহরিয়ার আলম সোহাগসহ তিনজনের নামে ৫০০/৫০১ ধারায় অভিযোগ দিয়েছেন আব্দুস সালাম ও আজির উদ্দীন নামে কালীগঞ্জ অগ্রনী ব্যাংক শাখার এই দুই কর্মচারী।মানববন্ধন থেকে দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত এই দুই ব্যাংক কর্মচারীর শাস্তির দাবি জানানো হয়। ব্যাংকের এই দুই কর্মচারী সম্প্রতি টাকা চুরির দায়ে সাময়িক বরখাস্ত রয়েছেন।

আঃ আলীম এর মৃত্যুতে নাগরপুর এসএসসি ব্যাচ-২০০৭ এর গভীর শোক প্রকাশ

 আঃ আলীম এর মৃত্যুতে নাগরপুর এসএসসি ব্যাচ-২০০৭ এর গভীর শোক প্রকাশ

ডা.এম.এ.মান্নান,টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি: টাংগাইলের নাগরপুর উপজেলা ঐতিহ্যবাহী দুয়াজানীর সন্তান, নয়ান খান মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি ২০০৭ ব্যাচের মেধাবী ছাত্র মো.আব্দুল আলীম আর নেই।

সোমবার দিবাগত রাত ১৭ নভেম্বর ২০২০ খ্রি.রাত আনুমানিক ২.০০ টায় চিকিৎসাধীন অবস্হায়  ঢাকায় একটি হসপিতালে হার্ট এ্যাটাক করে  ইন্তেকাল করিয়াছেন-ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।মৃত্যুকালে তার বয়স ছিল ৩০।সাবেক মেধাবী ছাত্র মো.আ.আলীম এর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন সমগ্র নাগরপুর উপজেলা এসএসসি ব্যাচ ২০০৭ এর সকল ছাত্র-ছাত্রীরা।

আজ মংগলবার সকাল ১১.৩০ টায় দুয়াজানী মহিলা দাখিল মাদ্রাসা মাঠে  জানাযা শেষে সামাজিক কবর স্হানে মরহুম আ.আলীম কে দাফন করা হয়।

২০০৭ এসএসসি ব্যাচের সকল ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষ থেকে মরহুম আ.আলিম এর জন্য সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছেন, মহান আল্লাহ যেন আ.আলীম কে জান্নাত নসিব করেন,আমিন।

মরহুম আ.আলীম এর সংক্ষিপ্ত পরিচয়--মেধাবী ছাত্র হওয়া সত্তেও আ.আলিম বেশী লেখা পড়া করতে পারি নি। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত নাগরপুর পল্লি বিদুৎ সমিতির অনুমোদিত ইলেকট্রিশিয়ান হিসাবে অত্যন্ত দক্ষ ও সুনামের সহিত কর্মরত ছিলেন। তিনি ছিলেন নরম মনের মানুষ, সাদাসিদে চলাচল করতেন, বিপদ আপদে সকলের পাশে দাড়াতেন।

উদ্দেশ্য প্রনোদিত মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনে নিন্দা জানিয়েছেন স্থানীয়রা

 উদ্দেশ্য প্রনোদিত মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনে নিন্দা জানিয়েছেন স্থানীয়রা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার পক্ষিয়া ৭নং ওয়ার্ডের বরাত দিয়ে গতকাল একটি অনলাইন পত্রিকায় সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত একটি নিউজ পরিবেশন করা হয়েছে। নিউজে দোষী সব্যাস্ত করা হাজিপুর ইসলামিয়া সিনিয়র ফাযিল মাদ্রাসার সম্মানিত প্রভাষক মোঃ নাজিউর রহমান কপোতাক্ষ নিউজ কে বলেন, এই নিউজটি সম্পূর্ণ আমার ও আমার পরিবারকে হেয় প্রতিপন্ন করা জন্য করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমার বাসার সামনে একদল যুবক প্রায় প্রতিদিন জুয়ার আসর করে থাকে। তাঁরা সেখানে বিভিন্ন রকম খেলার আয়োজন করে,কখনো ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে,কখনো ফুটবল আবার কখনো বা মোবাইলে গেমস বাজি ধরে। যেহেতু আমার পরিবারের সামনে এহেন বাজে খেলার আয়োজন করে সেহেতু আমাদের খারাপ লাগারই কথা। কারন এটি সম্পূর্ন হারাম ও অসামাজিক খেলা। এগুলো প্রতিবাদ করা আমাদের ঈমানি দায়িত্ব। দায়িত্বের বশবর্তী হয়ে গতকাল ১৬ নভেম্বর রোজ সোমবার পক্ষিয়া ইউনিয়ন ৭নং ওয়ার্ডের স্থানীয় কলেজ ছাত্র কে মোঃ শিহাব ও তার দলকে এগুলো খেলতে বারন করলে তাঁর সাথে আমার কিছুটা কথা কাটাকাটি হয়,এছাড়া কিছুই হয় নি। অথচ শিহাব বলতেছে তাঁকে নাকি পিটিয়ে হাত ভেঙে পেলেছি, যা পুরোপুরি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। আমি এরকম ভিত্তিহীন ও নোংরা নিউজের প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সাথে সাথে এই পত্রিকার সম্পাদকের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি, নিউজের সত্যতা জেনে নিউজ আপ করবেন। তাহলে আপনার পত্রিকার সুনাম অক্ষুন্ন থাকবে।

পাশাপাশি স্থানীয় লোকজন দাবী করেন, নাজিউর রহমান আমাদের এলাকার গর্ব, তুখোর মেধাবী ও প্রচন্ড সমাজকর্মী। নাজিউর রহমানকে হেয় প্রতিপন্ন ও বিতর্কিত করার জন্য একটা চক্র এই ধরনের নিউজ করেছে। আমরা এই মিথ্যা  নিউজের প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

কলাপাড়ায় জমি দখল করে বিক্রির অভিযােগ

 কলাপাড়ায়  জমি দখল করে বিক্রির অভিযােগ

কলাপাড়া উপজেলা প্রতিনিধি॥পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সরকারী খাস জমিসহ পানি উন্নয়ন বাের্ডের জমি দখল করে বিক্রির অভিযােগ উঠেছে। জনপ্রতিনিধিসহ স্থানীয় দের অভিযােগ বড় ভাই মুক্তিযােদ্ধা অহিদুল আলম তালুদারের বন্দবস্ত প্রাপ্ত দেড় একর জমির কাগজ দখিয়ে এসব জমি বিক্রি করছেন ছােটভাই জহিরুল আলম তালুকদার। 

অপরদিকে জহিরুল আলম তালুকদারের দাবী স্থানীয় প্রভাবশালী চক্র বন্দোবস্তকৃত এই জমি দখলের জন্য তাদের নানাভাবে হয়রানি করে আসছে।স্থানীয়দের অভিযােগ, মুক্তিযােদ্ধা অহিদুল আলম তালুকদার উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের চান্দুপাড়া মৌজার ৩৬৬ নং খতিয়ানের ১৪৮৬ নম্বর দাগে দেড় একর বন্দোবস্ত হিসাবে প্রাপ্ত হন। মুক্তিযােদ্ধা বাজারের উত্তর পার্শ্বের এই জমি প্লট আকারে বিক্রি করছে ছাটভাই জহিরুল আলম তালুকদার। প্রতিটি প্লট ২ থেকে সাড়ে ৩ লক্ষ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। আলাউদ্দিন ফরাজী, সজীব ফরাজী, ইলিয়াস হাওলাদার, রেজাউল মাঝি, শাহাব উদ্দিন মাঝি, দুলাল হাওলাদার, হাবিব হালদারাসহ ৭/৮জন এসব প্লট ক্রয় করে টিনশেড ঘর উত্তােলন করেছে। পানি উন্নয়ন বাের্ডের জমি দখল করে বিক্রি করতে গেলে বাঁধা দেয় স্থানীয়রা।

মঞ্জুপাড়ার জলিল গাজী বলেন, অহিদুল আলম তালুদারের বন্দোবস্তকৃত দেড় একর জমি অন্যত্র হলেও বাজারের সাথে দেখিয়ে অবাধে বিক্রি করছেন। এনিয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে একই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাসুদসহ ৬জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন জহিরুল আলম তালুকদার।

লালুয়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মাসুদ বলেন, সরকারী জমি দখল ও বিক্রির বিষয়টি নিয়ে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযােগ করলে ওই জমিতে ঘর তালাসহ বিক্রি করতে নিষেধ করা হয়। কিন্তু এ নির্দেশ আমলে না নিয়ে জহিরুল আলম তালুকদার জমি বিক্রি করেই যাচ্ছেন।

পানি উন্নয়ন বাের্ড কলাপাড়া সার্কেলের উপ-সহকারী প্রকৌশলী তাজুল ইসলাম বলেন, সরজমিনে গিয়ে জহিরুল আলম তালুকদার কে ঘর উত্তােলনে নিষেধ করে দেয়া হয়েছে।কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মাহাম্মদ শহীদুল হক বলেন, বিষযটি জেনেছি। তদন্ত করে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কিশোরগঞ্জ সোনামণি স্কুলে ২০ হাজার টাকা জরিমানা

 কিশোরগঞ্জ সোনামণি স্কুলে ২০ হাজার টাকা জরিমানা

মোঃ লাতিফুল আজম,নীলফামারীপ্রতিনিধিঃনীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার প্রাণ কেন্দ্র অবস্থিত কিশোরগঞ্জ সোনামণি আইডিয়াল স্কুলে কোচিং ও স্কুলের পরীক্ষা গ্রহনের অপরাধে  ওই স্কুল পরিচালকের ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

মঙ্গলবার সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) পুলিশকে সাথে নিয়ে ওই প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালায়। স্কুলের বাহিরে মূল গেট বন্ধ থাকলেও ভিতরে শিক্ষার্থীদের ক্লাশ ও পরীক্ষায় অংশগ্ৰহণ নেয়। সরকার ঘোষিত সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও প্রায় একমাস থেকে গোপনে ওই প্রতিষ্ঠানে কোচিং,ক্লাশ ও পরীক্ষা চলমান রাখায় ভ্র্যাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মেহেদী হাসান ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মেহেদী হাসান বলেন,আমরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালালে প্রতিষ্ঠানের ভিতরে ক্লাশ ও পরিক্ষা নেওয়ার সময় হাতে নাতে ধরা পরে। ওই প্রতিষ্ঠানকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং সরকারী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানে কোন ক্লাশ পরীক্ষা না নেয়ার জন্য মুচলেকা নেয়া হয়।

শেখ রিজিয়া নাসেরের নামাজে জানাযা ও দাফন আজ

 শেখ রিজিয়া নাসেরের নামাজে জানাযা ও দাফন আজ

তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা নগর প্রতিনিধিঃগতকাল রাত ৯:০০ টায় শহীদ শেখ আবু নাসের-এর সহধর্মিনী,মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর একমাত্র চাচী, বাগেরহাট-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য শেখ হেলালউদ্দিন এমপি খুলনা-২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য শেখ সালাউদ্দিন জুয়েল, শেখ সোহেল, শেখ রুবেল ও শেখ বাবুর মাতা, বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময় এর দাদী, শ্রদ্ধেয়া শেখ রিজিয়া নাসের ইন্তেকাল করেছেন। 

বেগম রিজিয়া নাসের এর নামাজে জানাযা আজ যোহর বাদ বনানী কবরস্থান সংলগ্ন মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে এবং জানাযা শেষে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে৷বাগেরহাট - ২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময় তার দাদীর জানাযায় সকলকে অংশগ্রহণের জন্যে অনুরোধ করেছেন ও সকলের কাছে তার দাদীর জন্যে দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

সাতক্ষীরা'র পল্লীতে চাচিকে মেরে রক্তাক্ত, ৭ হাজার টাকায় মিমাংসা

 সাতক্ষীরা'র পল্লীতে চাচিকে মেরে রক্তাক্ত,  ৭ হাজার টাকায় মিমাংসা

আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা'র পল্লীতে পারিবারিক দন্ধে ভাসুর'পো কর্তৃক চাচি রক্তাক্ততের ঘটনায়, অবশেষে গ্রাম্য শালিসি বৈঠকে চিকিৎসা খরচ বাবদ ৭ হাজার টাকা জরিমানার মধ্য দিয়ে, মিমাংস হয়েছে। 

সোমবার (১৬নভেম্বর) রাত ১০ টা নাগাদ এই মিমাংসার মধ্য দিয়ে পরি সমাপ্তি ঘটে পরস্পর দন্ধিত দু'টি পরিবারের। 

ঘটনার বিবরণে প্রকাশ বাচ্চাদের চড়ুই ভাতিকে কেন্দ্র করে, পাটকেলঘাটা থানার অন্তর্গত গড়েরডাঙ্গা গ্রামের, আরিজুল ইসলাম এর কন্যা ফারজানা ও আয়ুব আলি খোকন এর ছেলে বাপ্পি'র স্ত্রী'র সাথে নদদ ভাবির তর্ক বিতর্কের সৃস্টি হয়। যার এক পর্যায়ে অশ্লীল বাক্য ব্যাবহার কে কেন্দ্র করে, ১৪ নভেম্বর প্রভাতেই বাপ্পি তার স্ত্রী'র সাথে অশ্লীল ভাষা প্রয়োগের প্রতিবাদ করতে  প্রতিবেশি চাচি আরিজুল ইসলাম এর স্ত্রী'র সাথে পুনরাই অশ্লীল বাক্য ব্যবহারকে কেন্দ্র করে, বাপ্পি তার চাচিকে ক্ষিপ্ত হয়ে ঝাঁটা দিয়ে আঘাত করে, যার ফলে চাচির চোখ ফুলে রক্ত পাতের সৃষ্টি হয়। 

এক পর্যায়ে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে সাতক্ষীরা সদরের একতা ক্লিনিক এ ভর্তি করা হয়। এব্যাপারে আরিজুল ইসলাম মামলার প্রস্তুতি নিলেও গ্রাম্য মাতবর দের অনুরোধে মামলা করা থেকে বিরত থাকেন।

মাতবরদের গ্রাম্য শালিসি বৈঠকের এক পর্যায়ে ৭ হাজার টাকা চিকিৎসা খরচ বাবদ জরিমানার মধ্য দিয়ে উভয় পরিবারের দন্ধের অবসান হয়।

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে র‌্যালী

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে র‌্যালী


মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,  কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়া উপজেলার ভাটেরা ইউনিয়নে বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ ও তালামীযে ইসলামিয়া ভাটেরা ইউনিয়ন শাখার যৌথ উদ্যোগে  পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে ‘মুবারক র‌্যালি’ ১৬ নভেম্বর সোমবার  অনুষ্ঠিত হয়েছে। র‌্যালিতে প্রিয়নবীর শানে রচিত কালজয়ী নানা কবিতার শ্লোক অঙ্কিত রঙবেরঙের ফেস্টুন ও প্লেকার্ড হাতে নিয়ে আশিকে রাসূল ছাত্র-জনতা ভাটেরার গুরুত্বপূণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সমবেত কন্ঠে সুরে সুরে ধ্বনিত হয় প্রিয়নবীর প্রশংসাগীতি। সালাম সালাম নবী সালাম সালাম, মাওলা ইয়া সাল্লি ওয়া সাল্লিম, বালাগাল উলা-বি কামালিহি, শামছুদ্দুহা আস্সালাম, ... এ রকম অগণিত নাত-এর সুমধুর সুর লহরি ভাটেরার আকাশ বাতাস মুখরিত করে।

এ সময় র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ কুলাউড়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জননেতা মাওঃ ফজলুল হক খান শাহেদ, সিলেট মহানগর তালামীযের সহ সভাপতি ছাত্রনেতা এম এ সামাদ আজাদ,কুলাউড়া উপজেলা তালামীযের সভাপতি এম আফজাল হোসেন সাজু, সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হাসান শাকিল, ভাটেরা ইউনিয়ন আল ইসলাহ'র সভাপতি হাঃ অলিউর রহমান, সাধারণ সম্পাদক, হাঃ হিফজুর রহমান সিদ্দিকী, ইউনিয়ন তালামীযের সভাপতি নাঈম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান।

মুবারক র‌্যালি তে অংশ গ্রহণের জন্য সকাল থেকেই ভাটেরায় অবস্থিত ভাটেরা দারুস সুন্নাহ দাখিল মাদরাসা ময়দানে ভাটেরার প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে সর্বস্তরের ছাত্র-জনতা জমায়েত হন।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভাটেরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ এ কে এম নজরুল ইসলাম,ভাটেরা দারুস সুন্নাহ দাখিল মাদরাসার নবনিযুক্ত সুপার মাওঃ মুজিবুর রহমান চৌধুরী,ভাটেরা স্টেশন বাজার বনিক সমিতির সভাপতি আকমল হোসেন তালুকদার, ভাটেরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বদরুল আলম সিদ্দিকী নানু, চৌধুরী বাজার আলিম মাদরাসার সহ সুপার মাওঃ নাজমুল হোসেন, কুলাউড়া নবীন চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক সোহেল আহমদ, আনজুমানে আল ইসলাহ কাতারের সহ সভাপতি হাঃ আমিনুল ইসলাম, ভাটেরা ইউনিয়ন আল ইসলাহ'র সহ সভাপতি মাওঃ আব্দুল কাইয়ুম, মাওঃ সদর উদ্দিন সিদ্দিকী, সহ সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ইলিয়াছ আলী, তালামীযে ইসলামিয়া কুলাউড়া উপজেলা শাখার সহ সভাপতি আব্দুর মুবিন, ভাটেরা ইউনিয়ন আল ইসলাহ'র সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ সুহেল, প্রচার সম্পাদক মাওঃ রেহান আহমদ, অর্থ সম্পাদক মাওঃ আব্দুস সামাদ, বরমচাল ইমাম সমিতির সভাপতি মাওঃ সোহেল আহমদ,সাধারণ সম্পাদক মাওঃ মারুফ আহমদ, মনসুর ফাজিল মাদরাসার শিক্ষক রাজু মিয়া, ভাটেরা স্টেশন বাজার খানকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আজমল হোসেন চুনু, কুলাউড়া সংলাপ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার শাকিল সিদ্দিকী খালেদ,  ঘিলাছড়া ইউনিয়ন তালামীযের সভাপতি আব্দুল হামিদ হুমায়দী, বরমচাল ইউনিয়ন তালামীযের সভাপতি এলিট চৌধুরী, ভাটেরা গার্লস স্কুলের শিক্ষক কাউছার আহমদ মুন্না, মুক্তাজিপুর হাফিজি মাদরাসার প্রধান শিক্ষক হাঃ রুহুল আমিন, দি কুরআনিক হোম মাদরাসার প্রধান শিক্ষক হাঃ সামছুল ইসলাম,সহকারী শিক্ষক হাফিজ হাকিম আল হাসান, হরিপুর সাত্তার সামেলা মাদরাসার শিক্ষক হাঃ নেছার আহমদ, যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম রুকন, ভাটেরা ইউনিয়ন তালামীযের সহ সভাপতি হাঃ বাবলু আহমদ, রুহুল আমিন রাজু, বরমচাল ইউনিয়ন তালামীযের সাধারণ সম্পাদক সাহেল আলী চৌধুরী, ভাটেরা ইউনিয়ন তালামীযের সহ সাধারণ সম্পাদক শাহ আব্দুল মজিদ রাশেদ, সাজু মিয়া, কাতার প্রবাসী আব্দুর কুদ্দুস সিদ্দিকী, সৌদিআরব প্রবাসী মাছুম আহমদ, জায়েদ সিদ্দিকী, সাহেদ সিদ্দিকী, মারুফ আহমদ জুয়েল, হাঃ হাবিবুর রহমান, সাঈদ সিদ্দিকী, জাহাঙ্গীর হোসেন সেজু, মুজিবুর রহমান, কাউছার আহমদ,মইনুল ইসলাম সিদ্দিকী,আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ

পবিত্র ঈদে মীলাদুন্নবী (সা.) র‌্যালিকে সফল ও সার্থক করে তোলাসহ সর্বাত্মক সহযোগিতার জন্য সর্বস্তরের জনসাধারণের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন আয়োজক কমিটি।

কোটচাঁদপুর পৌর সভার ওয়ার্ড বিএনপির কমিটি গঠন

কোটচাঁদপুর পৌর সভার  ওয়ার্ড  বিএনপির  কমিটি গঠন

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃঝিনাইদহ জেলা বি এন পি'র আহবায়ক কমিটির সদস্য,, কোটচাঁদপুর পৌর বি এন পি'র  আহবায়ক,, সাবেক সফল পৌর মেয়র  জননেতা এস কে এম সালাহউদ্দিন বুলবুল সিডল  এর সভাপতিত্বে  ও জেলা বি এন পি'র সদস্য,, কোটচাঁদপুর পৌর বি এন পি'র  সদস্য সচিব  বারবার নির্বাচিত  জনপ্রিয় কাউন্সিলর  মোঃ ফারুক হোসেন খোকন এর সঞ্চালনায়  সোমবার সন্ধায়। কোটচাঁদপুর পৌর সভার  ৮ নং বিএনপির  সম্মেলন  ২০২০  অনুষ্ঠিত হয়,,,  সম্মেলনে  প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন  জেলা বি এন পি'র  সাবেক সহ সভাপতি, আহবায়ক কমিটির সদস্য   জনাব আবু বকর বিশ্বাস,, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন  জেলা বি এন পি'র  সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক,, আহবায়ক কমিটির সদস্য,, সাবেক ছাত্রনেতা  ফারুকুল আলম শেখা,, পৌর বি এন পি'র  যুগ্ম আহবায়ক  মোঃ আবুল কাশেম,, মোঃ রোস্তম কবির,,  মিজানুর রহমান খোকন,, পৌর বি এন পি নেতা  মোঃ হোসেন আলী (সাবেক কাউন্সিলর), শাহরিয়ার রহমান মামুন,,  জামাল সরদার,,মীর্জা টিপু, যুবদল আহবায়ক ফয়েজ আহমেদ তুফান, সদস্য সচিব  সেলিম রেজা মধু, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, সেচ্ছাসেবকদল সাধারণ সম্পাদক  শাহানুর ইসলাম শাহান,, মৎস্যজীবিদল আহবায়ক  মোঃ আব্দুল মান্নান, ছাত্রদল আহবায়ক  সাজ্জিদ ইসলাম নিশু,, ,, মোঃ বেনজামিন,, সেচ্ছাসেবকদল নেতা  মোমিনুর রহমান হীরা,, মোঃ আব্দুল  আলীম,ছাএদল  যুগ্ম আহবায়ক  মেহেদী হাসান করিম,, সাজিদ ইসলাম রকি, হুমায়ুন আজাদ,  ছাএনেতা  কাজী মেহেদি হাসান আজিম,,  সরঃ কে এম এইচ কলেজ ছাত্র দলের আহবায়ক শাওন খান সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ,,,, সম্মেলনে  সর্বসম্মতিক্রমে   মোঃ মিজানুর রহমান মিজান কে  সভাপতি,,, হাফিজুর রহমান স্বপন(সাবেক কাউন্সিলর) কে  সাধারণ সম্পাদক  ও মোঃ রুহুল আমীন  কে সাংগঠনিক সম্পাদক  করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করেন  এস কে এম সালাহউদ্দিন বুলবুল সিডল  ।

মামাতো ভাইয়ের ইটের আঘাতে প্রান গেল ফুফাতো ভাইয়ের

 মামাতো ভাইয়ের ইটের আঘাতে প্রান গেল ফুফাতো ভাইয়ের

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃঝিনাইদহ সদর উপজেলার গান্না ইউনিয়নের কাশিমনগর গ্রামে ফারাজের জমি ভাগাভাগী নিয়ে সংঘর্ষে মাথায় ইটের আঘাতে মারাত্বক আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গোলাম রসুল (৩৪) নামে একজন মারা গেছেন। নিহত গোলাম রসুল ঐ গ্রামের (মাঠপাড়া) মোজাম্মেল হক ভাদুর ছেলে।

এ ঘটনায় সোমবার ঝিনাইদহ সদর থানায় ৩ জনের নাম উল্যেখসহ অজ্ঞাত আসামীদের নামে মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। যার মামলা নং-২৯।

ঘটনার বিবরণে নিহতের পরিবার জানান, রবিবার (১৫ই নভেম্বর) সন্ধায় ইউনিয়নের চুলকানি বাজারে (জিয়ানগর) এ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কয়েক দফা শালিস হয়। এরই জের ধরে উভয়ের মধ্যে বাক বিতণ্ডার এক পর্যায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে তারা। এসময় নিহত গোলাম রসুলের উপর হামলা করে তার মামাতো ভাই কাদের ও তার ছেলে মাছুম এবং সিরাজ ও তার ছেলে কামরুল। এসময় হামলাকারীদের ইটের আঘাতে রক্তাক্ত জখম হয় গোলাম রসুল। পরিবারের লোক তাৎক্ষনিক তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থা আশংকাজনক দেখে কর্তব্যরত ডাঃ তাকে ফরিদপুর মেডিকেলে রেফার্ড করেন। সোমবার দুপুরে ফরিদপুর থেকে তাকে পূণরায় ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। ঢাকায় নেওয়ার পথে মানিকগঞ্জ এলাকায় পৌঁছালে পথি মধ্যে তার মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমদাদুল হক (তদন্ত) জানান, জমি নিয়ে দ্বন্দের কারণে রবিবার একটি সংঘর্ষের সময় আহত হয় গোলাম রসুল। তাকে প্রথমে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ সন্ধ্যায় ঢাকা নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় ৩ জনের নাম উল্যেখ সহ অজ্ঞাত নামে মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। তিনি বলেন, আসামিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।