ধারাবাহিক নাটক-("কাটা তারের বেড়া")রচনায়-সুজন অতিথি

ধারাবাহিক নাটক-("কাটা তারের বেড়া")রচনায়-সুজন অতিথি




মিঠুন কুমার রাজ, জেলা প্রতিনিধিঃ
সুজন অতিথির রচনায় ধারাবাহিক নাটক "কাটা তারের বেড়া",প্রযোজনায় -মাসুদুর রহমান,প্রধান সহকারী পরিচালক -শ্রাবণ আহম্মেদ নিক্কণ,পরিচালনায় -মাসুদ রানা।

অভিনয়ে-

সিদ্দিকুর রহমান,কাজল সুবর্ন,স্বপ্নীল,দ্বীপরাজ,মাসুম আজিজ,সফিক খান দিলু,হাসিমুন প্রমুখ।তরুন নির্মাতা মাসুদ রানা জানিয়েছেন গল্পটি হিন্দু সনাতন ধর্মের সিটমহল বাসিন্ধাদের জীবন জীবিকা ও সিটমহলের রিফুজি হিসেবে তাদের জীবন সংগ্রাম,বাংলাদেশ -ভারত সীমানা  বন্টন না হওয়াতে সরকারের সকল সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবার চিত্র ফুটিয়ে তুলেছে,প্রতিনিয়ত সিটমহল বাসিরা সীমান্ত বন্টনের স্বপ্নে এগিয়ে চলে,একটা সময় গ্রামে খুশির খবর আসে বাংলাদেশ -ভারত সীমানা বন্টন হয়ে গেছে,,আনন্দে গ্রাম বাসীরা উল্লাস করতে থাকে,, এর মধ্যেই তারা জানতে পারে যে,, কারো কারো সীমানা ভারতের  মধ্যে ও কারো কারো সীমানা বাংলাদেশের মধ্যে পড়েছে,ঘটনা ক্রমে গল্পের নাম ভুমিকায় নায়িকা সুনেত্রার সীমানা ভারতে পড়ে যায় আর এদিকে বিজয় চরিত্রের সিদ্দিকুরের বাড়ী পরে যায় বাংলাদেশে,,,,শুরু হয়ে যায় দেশ ত্যাগের যাত্রা,,,,কান্নায় ভারি হয়ে ওঠে সিটমহল বাসীর আকাশ বাতাস।নির্মাতা মাসুদ রানা জানান গল্পটি গ্রামীন পটভূমির বাস্তব দৃশ্য ও সংলাপে,, সমস্ত পরিশ্রম আর মেধা দিয়ে তিনি দর্শকদের আনন্দ দেবার চেস্টা করেছেন।তিনি আশা করেন যে ভাল ভাবে মননশীল নাটক নির্মান করতে পারলে দর্শকের মধ্যে বাংলা নাটকের গ্রহণ যোগ্যতা আবারো ফিরে আসবে।তিনি আরেকটি মেঘা সিরিয়ালের কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন খুব শীঘ্রই,গল্পের নাম এই মুহুর্তে প্রকাশ করতে চাইছেন না, সব কিছু ঠিক ঠাক থাকলে এ মাসের শেষের দিকে শুটিং শুরু হবার করার কথা।

নেত্রকোণা জেলার মদন উচিতপুর ট্রলার ডুবে ১৭ জনের মৃত্যু

নেত্রকোণা জেলার মদন উচিতপুর ট্রলার ডুবে ১৭ জনের মৃত্যু




স্টাফ রিপোর্টার : আর.জে মিজানুর রহমান ইমন : 

নেত্রকোণা জেলার মদন উপজেলা উচিতপুর হাওরে ট্রলার ডুবে ১৭ জনের মৃত্যু আরো ৪ জন নিখোঁজ হয়েছে । ঘটনাটি ঘটেছে, ৫ আগষ্ট বুধবার দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে । 

নিহতদের মধ্যে পনেরো জন পুরুষ এবং দুইজন শিশু জুলফা আক্তার (৭) ও তার বোন লুবনা আক্তার (১০) তারা হলেন, ময়মনসিংহ জেলার সদর উপজেলার সিরতা ইউনিয়নের চরখরিচা গ্রামের ওয়ারেছ উদ্দিনের মেয়ে । বাকিদের বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায় নি । তবে সূত্র জানায়, নিহত ১৭জনের মধ্যে ২শিশু বাদে ১৫ জনই মাদ্রাসার শিক্ষার্থী, তারা একটি সংগঠনের পক্ষ থেকে আনন্দ ভ্রমণের উদ্দেশ্য বের হয়েছিল । 

জানা যায়, বুধবার সকালে ময়মনসিংহ সদর উপজেলার সিরতা ইউনিয়নের চর ভবানিপুর কোণাপাড়া গ্রাম ও আটপাড়ার তেলিগাতি গ্রাম থেকে ৪৮জন লোক উচিতপুর এসে ট্রলারে করে ঘুরতে বের হয়, ট্রলারটি উচিতপুর হাওরে গোবিন্দশ্রী রাজকালী কান্দা স্থানে পৌঁছেতেই উত্তাল ঢেউয়ের কবলে পড়ে বেলা সাড়ে বারোটার দিকে ট্রলারটি ডুবে যায় । এতে ২২জন নিখোঁজ হন এবং বাকিরা সাঁতরে কিনারে উঠে ।  

খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলেই ছুটে আসেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ, উপজেলা চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, পৌর মেয়র আব্দুল হান্নান তালুকদার শামীম । পুলিশ সহ ফায়ার সার্ভিসের মাস্টার আহমেদুল কবিরের নেত্বত্বে ডুবুরিদল ঘটনাস্থলেই অভিযান পরিচালনা করেন । প্রায় ১ ঘন্টাব্যাপী অভিযান চালিয়ে ১৭জনের লাশ উদ্ধার করেন তারা । 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ বলেন, দুই শিশু সহ ১৭ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে  আরো ৪ জন নিখোঁজ রয়েছেন উদ্ধার করার অভিযান চলছে ।

সিরাজগঞ্জে একই দিনে ০৩টি বাল্যবিবাহ বন্ধ এবং ৩০ হাজার টাকা অর্থদন্ড

সিরাজগঞ্জে একই দিনে ০৩টি বাল্যবিবাহ বন্ধ এবং ৩০ হাজার টাকা অর্থদন্ড



 মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ অদ্য ০৫/০৮/২০২০ রোজ বুধ বার গোপন সূত্রের ভিত্তিতে গোপনে বাল্যবিবাহ হচ্ছে সংবাদ পেয়ে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে মোট ০৩ টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করেছেন সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ। 
এর মাঝে রতনকান্দি ইউনিয়নের খোদ্দবয়রা গ্রামের বছিরউদ্দিনের কন্যা 'ক' কে, বহুলী ইউনিয়নের হুমায়ুন শেখ এর কন্যা 'খ' কে এবং শিয়ালকোল ইউনিয়নের হায়দার আলীর কন্যা 'গ' কে বাল্যবিবাহ এর শিকার হওয়া থেকে রক্ষা করা হয় এবং সকলের অভিভাবকদের নিকট থেকে মুচলেকা আদায় করা হয়। 
'ক' দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী তার বয়স ১৬, 'খ' দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী বয়স ১৬ এবং 'গ' নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী বয়স ১৫। 
এসময় বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ এর আওতায় সর্বমোট ৩০,০০০/- (ত্রিশ হাজার টাকা) অর্থদন্ড দেয়া হয় এবং অভিভাবকদের কাছ থেকে ১৮ বছর হওয়ার পূর্বে বিয়ে দেবেন না মর্মে মুচলেকা নেয়া হয়। 
অভিযান পরিচালনায় সহযোগিতা করেন পৌর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা এবং আনসার বাহিনীর সদস্যগণ

দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে নৌকা ডুবে মা ও ছেলের মৃত্যু

দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে  নৌকা ডুবে মা ও ছেলের মৃত্যু


 কুষ্টিয়া প্রতিনিধি,মোঃ চঞ্চল হোসেনঃ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী পদ্মা তীরের রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নে শশুর বাড়ি মথুরাপুর থেকে বাবার বাড়ি যাওয়ার পথে ডিঙি নৌকা ডুবে মারা গেছে মা ও সন্তান।

বুধবার দুপুরের পর এই দূর্ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যাক্তিরা হলেন, মথুরাপুর ইউনিয়নের হোসেনাবাদ কান্দির পাড়ার আজবুল মৃধার স্ত্রী সেলীনা (২৮) ও বড় ছেলে সিয়াম (১০)। সেলীনার বাবা ও আরেক সন্তান কে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। তারা একই ডিঙি নৌকায় ছিলেন বলে স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে।

ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক হাসানের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে আত্রাই উপজেলা ছাত্রলীগের প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক হাসানের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে আত্রাই উপজেলা ছাত্রলীগের প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত




মোঃ ফিরোজ হোসাইন
রাজশাহী ব্যুরো
 
নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায় গত রবিবার ২রা আগষ্ট ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান হাসান ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিমের উপর অতর্কিত হামলা ও মারপিটের   প্রতিবাদে  বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা পালন করেছে আত্রাই  উপজেলা ছাত্রলীগ ও  মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগ। 
আজ বুধবার বিকাল ৫ ঘটিকায়  আত্রাই  আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন চত্বরে আত্রাই  উপজেলা ছাত্রলীগ ও মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের আয়োজনে আত্রাই উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহদী মসনদ স্বরূপের সভাপতিত্বে ও মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাব্বি পরিচালনায়  বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 
উক্ত বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভায়  উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি শ্রী নৃপেন্দনাথ  দও, উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি ও আত্রাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এবাদুর রহমান ,উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও ভাইস চেয়ারম্যান শেখ হাফিজুল ইসলাম, জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার শোয়েব,উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবির সোহাগ,মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিব হাসান প্রমুখ।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহদী মসনদ স্বরূপ বলেন এই  অতর্কিত হামলাকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করছি। 
মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল রাব্বি বলেন, আমি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করছি।সেই সাথে হামলাকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করছি।প্রতিবাদ সভায় ছাত্রলীগের সকল ইউনিটের নেতা কর্মী ও আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ,শ্রমিক লীগের নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুর মডেল থানার উদ্যোগে ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুর মডেল থানার উদ্যোগে ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 
( ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি) 

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর মডেল  থানা পুলিশের উদ্যোগে লক্ষীপুর  অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থায়ী করার লক্ষে ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 
৫-আগস্ট বুধবার সকাল ১০টার সময় দিনব্যাপি অনুষ্ঠানে দোড়া ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন কোটচাঁদপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাইমিনুল ইসলাম। কোটচাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুবুল আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠান পরিচালিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে ওয়ার্কশপে আরও বক্তব্য রাখেন কোটচাঁদপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শরিফুন্নেছা মিকি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান রিপন, কোটচাঁদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আলী, জেলা পরিষদের সদস্য  শামীম আরা হ্যাপি, দোড়া ইউপি চেয়ারম্যান কাবিল হোসেন প্রমুখ।
ওয়ার্কশপে অংশ গ্রহণ করেন উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ী, এনজিও প্রতিনিধি, শ্রমিক ও বিভিন্ন পেশাজীবি সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিক রেবা রহমানের ২য় মৃত্যুবার্ষিকীতে দোয়া

 সাংবাদিক রেবা রহমানের ২য় মৃত্যুবার্ষিকীতে দোয়া




স্টাফ রিপোর্টারঃ দৈনিক ইনকিলাবের স্টাফ রিপোর্টার এবং প্রেসক্লাব ও যশোর সাংবাদিক 
ইউনিয়নের (জেইউজে) সাবেক সদস্য রেবা রহমানের দ্বিতীয় মৃত্যুবাষিকীতে মঙ্গলবার তার 
বাসভবনে পারিবারিকভাবে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। 
সাংবাদিক রেবা রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে বাদ আছর নতুন খয়েরতলা জামে মসজিদ, নতুন 
খয়েরতলা কবরস্থান মসজিদ. হাসপাতাল মসজিদ ও গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহের চরমুরারীদহ মসজিদে 
দোয়া হয়। মরহুমের পরিবার তার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।
মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে রেবা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে তার স্মরণে বৃত্তি দেয়াসহ 
মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে কোন অনুষ্ঠান করা সম্ভব হয়নি বলে মরহুমের পরিবার আন্তরিক দুঃখ 
প্রকাশ করেছেন।

পাত্রী চাই! পাত্রী চাই!

পাত্রী চাই!  পাত্রী চাই!


 
  
যশোর জেলার ভিতর একজন বয়স্ক পাত্রী চাই।ডিভোর্স কৃত/ বিধবা (বন্ধা) পাত্রী চাই। পাত্রীর বয়স হতে হবে( ৩৫-৪০) বছর।
যোগাযোগঃ ০১৯১৮৪০৮৮৬৩

মোংলায় গাজাসহ তিন মাদক বিক্রেতাকে আটক করেছে পুলিশ

মোংলায় গাজাসহ তিন মাদক বিক্রেতাকে আটক করেছে পুলিশ




মোংলা প্রতিনিধিঃগাজাসহ তিন মাদক বিক্রেতাকে আটক করেছে মোংলা থানা পুলিশ। গোপন সংবাদের ভিত্তিত্তে বুধবার সকালে মোংলা পোট পৌরসভার দিগন্ত স্কুল সংলগ্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই মাদক বিক্রেতাদের আটক করা হয়। এসময় তাদের শরির তল্লাশি করে একশ গ্রাম গাজা উদ্ধার করা হয়। আটককৃতরা হলো কবরস্থার রোড় এলাকার বাসিন্ধা মোঃ সোহাগ সরদার(২০), মালগাজী গ্রামের বাসিন্ধা মোঃ হাসিব চৌকিদার ও কবরস্থার রোড়ের রাতারাতি কলোনির বাসিন্ধা কবির ফরাজি(৫০)। 

মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান,মাদক নিমূলে নানা ধরনের কর্মকান্ড অব্যাহত রেখেছে মোংলা থানা পুলিশ। এর ধারা বাহিকতায় সোর্সের মাধ্যমে খবর পেয়ে ওই তিন মাদক কারবারিকে গাজা বিক্রয়ের সময় হাতেনাতে আটক করা হয়। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ২০১৮ এর ৩৬(১)এর ১৯ এর (ক)ধারা মোতাবেক মামলা দায়ের শেষে বাগেরহাট আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদের সহযোগিতায় ছোনগাছা ইউনিয়নে বান ভাসি মানুষের মধ্যে শুকনা খাবার বিতরণ

সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদের সহযোগিতায় ছোনগাছা ইউনিয়নে বান ভাসি মানুষের মধ্যে শুকনা খাবার বিতরণ



মাসদু রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ  সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদের সহযোগিতায় জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব গোলাম রব্বানী তাং ও নাছরীন ইসলাম তাং এর উদ্দ্যোগে বানভাসি দুস্থ, অসহায়, কর্মহীন ৩৫০ পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে। বুধবার ৫ আগষ্ট ছোনগাছা ইউনিয়ন পরিষদে বিকাল ৪টায় উক্ত শুকনো খাবার বিতরণ উদ্ভোদন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ছোনগাছা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও অত্র ইউনিয়ন আঃলীগের সভাপতি শহিদুল আলম, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, আঃযুবলীগের সভাপতি রিমোন, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, অত্র ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মোঃ সেলিম রেজা, জহুরুল ইসলাম, মুকুল হোসেন, সহ সকল আঃসহযোগী সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দ প্রমুখ। উক্ত উদ্ভোদনী অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের সদস্য বক্তব্য শেষে শুকনো খাবার (চিরা, গুড়, স্যালাইন, পানি বিশুদ্ধ করন ট্যাবলেট) বিতরণ করেন। বক্তারা তাদের বক্তব্য বলেন আঃলীগ সরকার জনগণের সরকার, আমরা আপনাদের পাশে আছি, থাকবো।

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিয়ে বাড়ির খাবার খেয়ে ২৫ জন অসুস্থ

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিয়ে বাড়ির খাবার খেয়ে ২৫ জন অসুস্থ



মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিয়ে বাড়ির খাবার খেয়ে বরযাত্রী, কনের আত্মীয় স্বজনসহ অন্তত ২৫ জন অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। উপজেলার পাঁচুপুর ইউনিয়নের ধুলাউড়ি গ্রামে কনে বাড়ির খাবার খেয়ে এ ঘটনা ঘটেছে। 
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারণে পেটের পীড়ায় আক্রান্ত হয়েছেন তারা।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার আহসানগঞ্জ  ইউনিয়নের দাড়িয়াগাঁথী গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে সঙ্গে উপজেলার পাঁচুপুর  ইউনিয়নের ধুলাউড়ী গ্রামের আমজাদ হোসেনের মেয়ের বিয়ে বিকেলে সম্পন্ন হয়। রাতে খাওয়ার পর অনেকেরই পেটে ব্যথা শুরু হয়। এভাবে পেটের পীড়ায় আক্রান্ত হয়ে গতকাল রাত থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত একে একে ২৫/২৬জন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন।
হাসপাতালে ভর্তি অসুস্থ মেয়ের চাচা ওয়াহেদ বলেন, মঙ্গলবার রাতে বিয়ের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ি। সকালে ওঠে দেখি পেটে ব্যথা ও পাতলা পায়খানা হচ্ছে। অবস্থার অবনতি হলে আমাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এর টিএইচএ ডাঃ রোখসানা হ্যাপি বলেন, খাদ্যে বিষক্রিয়ায় থেকে এমন সমস্যা হয়েছে। সবাইকে যথাযথভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে ।

নওগাঁ-৬(আত্রাই-রাণীনগর) আসনের উপনির্বাচনে এমপি পদপ্রার্থী নাহিদ ইসলাম বিপ্লবের গনসংযাগ

নওগাঁ-৬(আত্রাই-রাণীনগর) আসনের উপনির্বাচনে  এমপি পদপ্রার্থী নাহিদ ইসলাম বিপ্লবের গনসংযাগ





মোঃ ফিরোজ হোসাইন, রাজশাহী ব্যুরো: 
নওগাঁর আত্রাই ও রানীনগর উপজেলা নিয়ে গঠিত নওগাঁ-৬ সংসদীয়  আসন।
গত ২৭ জুলাই এ আসনের এমপি ইসরাফিল আলম মারা যাওয়ায় আসনটি শুন্য হয়। এ শুন্য আসনে উপ-নির্বাচনকে লক্ষ করে  ইতোমধ্যে এ আসন থেকে আওয়ামীলীগের কয়েকজন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা জনসংযোগ শুরু করেছেন। 

নওগাঁ-৬(আত্রাই
-রাণীনগর) আসনের উপনির্বাচন এমপি পদপ্রার্থী হিসাবে আত্রাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নাহিদ ইসলাম বিপ্লব গনসংযাগ করেছেন।
বুধবার সকালে তার নিজ গ্রাম জাতআমরুল হতে আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত দলীয় নেতাকর্মী  এবং ভোটারদের সঙ্গে নিয়ে আনুষ্ঠানিক এ গনসংযাগ শুরু করেন। আহসানগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে সংক্ষিপ্ত এক বক্তৃতায় তিনি বলেন, আমার বড়ভাই প্রয়াত সিদ্দিকুর রহমান রাজা আত্রাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসাবে যখন জনপ্রিয় হয়ে উঠলেন । এমপি পদপ্রার্থীর মনোনয়ন  সৎ ও কর্মাঠ হিসেবে সুখ্যাতি চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লো শান্তি ও উন্নয়নের ধারা ব্যাহত করতে এক শ্রেণির স্বার্থলোভী মহল ১৯৯৯ সালের ৩০ শে মার্চ তাঁকে নির্মম ভাবে হত্যা করেন।এসময় ভাইয়ের স্বপ্নের আত্রাই -রাণীনগর বিনির্মানে শান্তি ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে পরিচ্ছন্ন রাজনীতির ধারা ফিরিয়ে এনে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালি করতে অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।
তিনি আত্রাই রাণীনগর বাসীর সুখ দুঃখের সাথী হয়ে মানুষের সেবায়  বিলিয়ে দিতে চাই নিজেকে।
তিনি উপনির্বাচনে নির্বাচিত হতে পারলে আত্রাই ও রাণীনগরের উন্নয়নের গতি তরান্বিত করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

কুড়িগ্রামে বখাটের ইভটিজিং এর কারণে স্কুল ছাত্রীর বিষ পানে আত্মহত্যার চেষ্টা

কুড়িগ্রামে বখাটের ইভটিজিং এর কারণে স্কুল ছাত্রীর বিষ পানে আত্মহত্যার চেষ্টা



কৃষ্ণ সরকার পীযূষ, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের উলিপুরে পন্ডিত মহির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্রী জুই আক্তার (১৫) বখাটে কিশোর গ্যাংদের কু-প্রস্তাব ও নানা রকম ইভটিজিং এবং অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বিষ পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। মুমুর্ষ অবস্থায় প্রথমে তাকে উলিপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। 


জুই এর বাবা জুলফিকার আলী জানান, কিশোর গ্যাং এর অন্যায় এবং বাড়ী ভাংচুরের প্রতিবাদ করায় প্রতিবেশী মুদি দোকানদার মিলন মিয়াকে দোকান থেকে তুলে নিয়ে মারাত্মক জখম করে। সে বর্তমানে মুমুর্ষ অবস্থায় কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে ৫নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে। কিশোর গ্যাং এর ভয়ে জুইয়ের বাবা ইলেকট্রেশিয়ান জুলফিকার আলী মানিক ও বাড়ীর সদস্যরা বাড়ী থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তারা এখন বাড়ীতে ঢুকতে পারছে না। উলিপুর থানায় এ কিশোর গ্যাং এর অন্যায়ের বিরুদ্ধে একটি মামলা হলেও এখন পর্যন্ত কোন আসামীকে ধরেনি পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সন্ধ্যায়।


জানা গেছে, উলিপুর উপজেলার নারকেলবাড়ী তেলিপাড়া গ্রামের ইলেকট্রেশিয়ান জুলফিকার আলী মানিক এর মেয়ে জুই আক্তার। ছোটবেলা থেকে মেধাবী জুই। তার বাবা জানায়, জুই পড়াশুনার প্রতি আগ্রহ বলে শত কষ্টেও তাকে  টিউশনি সহ সমস্ত খরচ দেন প্রতিনিয়ত। বেশ কিছুদিন থেকে এলাকার কিশোর শেখ ফরিদ, সেনা মিয়া তার মেয়েকে প্রেম , বিয়ে সহ নানা রকম প্রস্তাব দিয়ে আসছে। কিন্তু জুই তাতে রাজী হয়নি। এ কারণে ঐ দুজন সহ মামুন, খোকন, আঙ্গুর বিপুল, শাহীন, মুকুট, মনছুর প্রায় প্রতিদিন জুই প্রাইভেটে যাবার সময় ও বাড়ী থেকে কোথাও যাবার সময় নানা রকম ইভটিজিং করতো। এবং নানা রকম কু-প্রস্তাব দিত। তাদের এ অত্যাচার নীরবে সহ্য করতো সে। এক সময় অতিষ্ট হয়ে জুই বাধ্য হয়ে ঘটনা তার মাকে বলে। তার মা তার বাবাকে জানালে বিষয়টি ঐ কিশোরদের অভিভাবকদের জানায়। এটাই অপরাধ জুই এর বাবার। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ঐ কিশোর গ্যাং সোমবার দুপুরে জুই এর বাড়ীতে এসে তার বাবাকে বেধরক মারপিট করে।


ঘটনাটি উলিপুর থানায় অবহিত করলে পুলিশ আসলে তারা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পুলিশ চলে গেলে ঐদিন বিকালে আবার এসে বাড়ী ভাংচুর করে এতে বাধা দেয় প্রতিবেশী মুদি দোকানদার মিলন মিয়া। এর পর কিশোর গ্যাং মিলন মিয়াকে দোকান থেকে তুলে পাশ্ববর্তী একটি বিলের কাছে এলোপাথারী ভাবে ছুড়ি দিয়ে আঘাত করে বিলের পানিতে ফেলে যায়। একের পর এক ঘটনায় জুই সহ্য করতে না পেরে বাড়ীর মানুষদের অজান্তে বিষ পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। বাড়ীতে তার অবস্থার অবণতি হলে তাকে প্রথমে উলিপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপালে পাঠানো হয়। বর্তমানে কুড়িগ্রাম হাসপাতালে সে মৃত্যুর সংগে পাঞ্জা লড়ছে। চরম আতংকে দিন কাটাচ্ছে জুই এর পরিবার। সকলে বাড়ী থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। 


প্রতিবেশী মিলন মিয়ার বাবা আবদুল হাকিম জানান, এই কিশোর গ্যাং গ্রামে প্রায় নানা রকম অত্যাচার করে মানুষের সাথে। আমার ছেলে প্রতিবাদ করায় সে মৃত্যু পথযাত্রী। আমি এ অন্যায়ের বিচার চাই। 


ছাত্রী জুই জানায়, ঐ বখাটে যুবকরা প্রায় প্রতিদিন প্রাইভেটে যাবার সময় নানা রকম ইভটিজিং করে ও কু-প্রস্তাব দেয়। এদের মধ্যে সেনা ও ফরিদ সবচেয়ে বেশী ইভটিজিং করতো। নীরবে সহ্য করলেও যখন পারিনি তখন মাকে ঘটনাটি বলেছি। আমি ঐ বখাটেদের শাস্তি চাই।   


প্রতিবেশী রনি জানান, এই কিশোর গ্যাং ঐ এলাকায় মাদক সহ নানা রকম অন্যায় অত্যাচার করে আসছে। মানুষ ভয়ে কিছু বলার সাহস পায়নি এতদিন। তারা এ অন্যায়ের বিচার চান। 


উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা হয়েছে। আসামীদের ধরার প্রক্রিয়া চলছে। তিনি আরও বলেন আমি এর আগে এলাকায় ইভটিজিং এর অভিযোগ পাইনি।

সিঙ্গাপুরে আজকে নতুন ৯০৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত

সিঙ্গাপুরে আজকে নতুন ৯০৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত



মোঃনাইম শেখ,সিঙ্গাপুর প্রতিনিধি 

আজকে ৫ আগষ্ট (দুপুর ১২ টা পর্যন্ত) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া সর্বশেষ তথ্যমতে,সিঙ্গাপুরে আজকে নতুন ৯০৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।সিঙ্গাপুরে এখন পর্যন্ত মোট ৫৪২৫৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত করা হয়েছে। 

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বিশাল সংখ্যাগরিষ্ঠ হলো ডরমিটরিতে বসবাসকারী যাদের কোয়ারেন্টাইন অর্ডার বা আইসোলেশন শেষ করার পূর্বে পরীক্ষা করা হয়েছিল।

অভিবাসী কর্মীদের করোনামুক্ত করার চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। আগামী ৭ আগষ্ট এর মধ্যে ডরমিটরিগুলো করোনাভাইরাস মুক্ত করা হবে। তবে কয়েকটি ব্লক বাদ থাকবে৷ 

আজকে আক্রান্তদের মধ্যে ৩ জন সিঙ্গাপুরিয়ান বা পার্মানেন্ট রেসিডেন্স, ১ জন ওয়ার্ক পাশ হোল্ডার যিনি ডরমিটরির বাহিরে বাস করেন এবং ৪ জন বিদেশ ফেরত যারা স্টে হোম নোটিশে ছিলেন। বাকি সবাই ওয়ার্ক পাশ হোল্ডার যারা ডরমিটরিতে বাস করেন। 

করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে ৪ আগষ্ট ২৭৫ জন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন।এই পর্যন্ত মোট ৪৭৪৫৪ জন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন৷ 

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এই পর্যন্ত সিঙ্গাপুরে ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাছাড়া আরো ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে যারা করোনাভাইরাসে পজিটিভ ছিলো৷ কিন্তু তাদের মৃত্যু করোনাভাইরাসে নয় অন্য কোন কারণে হয়েছিলো। 

১২৫ জন এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন তবে ১ জন আইসিইউতে আছেন।৫৭৪০ জনের অবস্থা ক্লিনিক্যালি ভালো কিন্তু পরীক্ষায় করোনাভাইরাস পজিটিভ হওয়ায় তাদেরকে অন্য রোগীদের কাছ থেকে আলাদা রাখা ও যত্নের জন্য অন্যত্র সরিয়ে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে৷

মণিরামপুরে গৃহবধৃর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

মণিরামপুরে গৃহবধৃর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার





মোরশেদ আলম,যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধিঃ
যশোরে মণিরামপুরে শারমিন খাতুন (২১) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার হয়েছে।মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) রাত সাড়ে আটটার দিকে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।
মৃত শারমিন উপজেলার মধুপুর গ্রামের মাইক্রোবাস চালক রাজু আহমেদের স্ত্রী। রাজু-শারমিন দম্পতির এক বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে।
শারমিনের মৃত্যুকে ‘আত্মহত্যা’ বলে দাবি করেছেন তার শ্বশুর আলী আকবর। এই ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে মণিরামপুর থানায় অপমৃত্যু মামলাও করেছেন।
কিন্তু শারমিনের বাবা একই উপজেলার পদ্মনাথপুর গ্রামের আব্দুস সালাম দাবি করেন, তার মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে। এই ঘটনায় তিনি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।
শারমিনের শ্বশুর আলী আকবর বলেন, ‘মঙ্গলবার সকালে আমার ছেলে রাজু ভাড়া নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে বেরিয়ে পড়ে। এরপর আমরা স্বামী-স্ত্রী মধুপুর বাজারে যাই। সেখানে বসে খবর পাই শারমিন ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে।’
শারমিনের বাবা আব্দুস সালাম বলেন, ‘আমার মেয়ে আত্মহত্যা করতে পারে না। তিন-চার মাস ধরে জামাই রাজুর সাথে আমার দ্বন্দ্ব। সেই দ্বন্দ্বের কারণে তারা আমার মেয়েকে মেরে ফেলেছে। সকালে এই ঘটনা ঘটলেও তারা আমাকে খবরটা জানায়নি। পরে এক আত্মীয়র মাধ্যমে বিকেলে আমি বিষয়টি জানতে পারি।’
মণিরামপুর থানার এসআই সাহাবুল আলম বলেন, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। শারমিন ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না জড়িয়ে আত্মহত্যা করেছেন।
শারমিনের বাবার দাবির প্রসঙ্গে এসআই সাহাবুল বলেন, যে কোনো আত্মহত্যার পেছনে কোনো না কোনো কারণ তো থাকতেই পারে। তবে তার বাবা এই ব্যাপারে থানায় কোনো অভিযোগ করেননি। শারমিনের শ্বশুর আলী আকবর বাদী হয়ে অপমৃত্যু মামলা করেছেন।



খাঁটি সরিষার তেল, ঘি, হলুদ, মরিচ,ধনিয়া ও জিরার গুড়া অনলাইনে বিক্রি করছে-মুফতী নোমান কাশেমী

খাঁটি সরিষার তেল, ঘি, হলুদ, মরিচ,ধনিয়া ও জিরার গুড়া  অনলাইনে বিক্রি করছে-মুফতী নোমান কাশেমী




ডা.এম.এ.মান্নান,টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি:

মালিকের পরিচয়:শেখ রাশেদুল ইসলাম নোমান
ঠিকানা: মুসলিমপাড়া, টাঙ্গাইল 

দারুল উলূম দেওবন্দ (ভারত) পড়েছি ২০১৪ সালে।
ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ফরিদাবাদ মাদরাসায় ফরিদাবাদ পড়াশোনা করেছি দীর্ঘ সাত বছর।

আমরা আপনাদের হাতে ১০০%খাঁটি মাল পৌঁছে দিতে আল্লাহ তায়ালার কাছে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ, আপনাদের সাথে অঙ্গীকারবদ্ধ ও বিবেকের কাছে দায়বদ্ধ।

আমাদের নিজস্ব পন্য সমূহের পরিচয়:
১)খাটি সরিষার তেল, দেশ মাঘি সরিষা (মেশিনে ভাঙানো) 
খুচরা ১৬০ টাকা

২) খাঁটি গাওয়া ঘি
খুচরা মূল্য ১২০০ টাকা 

৩) কালোজিরার তেল 
১৬০০ টাকা লিটার 
৪)হলুদের গুড়া নিজস্ব 
খুচরা ৩০০ টাকা

৫)মরিচের গুড়া নিজস্ব
খুচরা ৪০০ টাকা

৬)স্পেশাল ধনিয়া মিক্স মশলা। 
খুচরা ৫০০ টাকা

৭)জিরার গুড়া নিজস্ব
খুচরা ৮০০ টাকা

৮)আতপ চালের গুড়া।
খুচরা ৫৫ টাকা

৯)বুটের বেশন নিজস্ব
খুচরা ১২০ টাকা

১০) দেশি গমের লাল আটা
৫০ টাকা কেজি

তেলের বৈশিষ্ট্য:
১)দেশি লাল মাঘি, হাই কলেটির সরিষা।
২) অন্য কোন সরিষা ও ভেজালের বিন্দু পরিমাণ মিশ্রণ নেই
৩) ১০০ %খাঁটির নিস্চয়তা প্রদান।
৪)প্রকৃতিক ঝাঝ।তেলের কালার ও ঝাঝের জন্য কোন কেমিক্যালের মিশ্রণ মুক্ত
৫) তেল ভাঙানোর সময় সার্বক্ষণিক নেগরানি।
৬) বিন্দু পরিমাণ ভেজাল প্রমানিত হলে, নিজ খরচে মাল রিটার্ন, টাকা ফেরত ।
৭) ফ্রেশ দানার ১০০% ফুডগ্রেড ও নতুন বোতলে তেল পরিবেশ।

ঘি'য়ের বৈশিষ্ট্য 
১) দেশি গরুর দুধের ক্রিমের গাওয়া ঘি।
২) সামনে থেকে বসে বানিয়ে আনা।
৩)সবধরনের ভেজাল মুক্ত
৪) দেশি গরুর দুধের ঘি।
৫) বিন্দু পরিমাণ ভেজাল প্রমানিত হলে, নিজ খরচে মাল রিটার্ন, টাকা ফেরত।

মরিচের বৈশিষ্ট্য।
প্রায় দশ বসরের বেশি হলো। আমরা নিজেরা মরিচ কিনে যত্ন সহকারে শুকিয়ে, পরিস্কার - পরিচ্ছন্নতার সাথে ভাঙিয়ে থাকি। আমাদের পন্য কোন ধরনের ভেজাল নেই, এক্সট্রা কোন কালার - রংয়ের মিশ্রণ নেই। যেগুলো সাধারণত বিভিন্ন কম্পানি করে থাকে। একটু দিলেই টক-টকা রং হয়। আমাদেরটা পিওর ১০০% ভেজাল মুক্ত।

আপনি ভালো একটি পাত্রে যত্ন সহকারে রেখে এক বছর খেতে পারবেন, নষ্ট হবে না। আল'হামদুলিল্লাহ আমরা সর-জমিনে টাঙ্গাইলের মানুষের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। এখন চাচ্ছি অনলাইনে বাংলাদেশের মানুষের আস্থা অর্জন করতে।
দেশি কালোজিরা গ্রামের গৃহস্তদের থেকে কেনা হয়েছে, কারো থেকে দশ কেজি, কারো থেকে পাচঁ আবার কারো থেকে বিশ কেজি, এমন করে কয়েক মন কালোজিরা কেনা অতপর তা ধুয়ে রৌদ্রে শুকিয়ে, নিজেদের তত্ত্বাবধানে ভাঙানো হয়েছে।
কালোজিরার তেলের বৈশিষ্ট্য 
আমাদের কালোজিরার ভেতর বিন্দু পরিমাণ ভেজাল নেই এবং ইন্ডিয়ান কালোজিরার কোন মিশ্রণও নেই, খরচ কমিয়ে আনতে অন্য কোন বস্তুর মিশ্রণ নেই, সম্পূর্ন দেশি ভালো দানার কালোজিরার তেল। মাত্র দুদিন আগে ভাঙানো হয়েছে। 

আমি আপনাকে মালের সর্বোচ্চ নিস্চয়তা দিতে পারবো এবং নির্ভেজালের গ্রান্টি দিতে পারবো তবে সব চেয়ে কম দামে দেওয়ার নিস্চয়তা দিতে পারবো না
তাছাড়া আমরা কোন মালই কম দামে দেওয়ার প্রতিযোগিতায় নামিনি তবে হ্যাঁ ভালো - খাঁটি পন্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিবো।
আমাদের পন্যের মূল্য কেনা ও ভাঙানো খরচ হিসাব করার পর ফিক্সড করি, সিমিত লাভে বিক্রি করার চেষ্টা করি, গলাকাটা ব্যবসার নীতি অনুসরণ করি না। আরেকটি কথা বাজারের সর্বোৎকৃষ্ট ও হাই কলেটির মাল ভাঙিয়ে থাকি ।

৪)ধনিয়া মিক্স মশলা
আপনি হয়তো ভাবছেন যে ধনিয়ার দাম ৫০০ টাকা কেজি কেন? অথচ ধনিয়ার গুড়া 200 টাকা কেজি পাওয়া যায়!
একটু দাঁড়ান আমি উত্তর দিচ্ছি, আমাদের মশলার নাম 'ধনিয়া মিক্স মশলা' যেটা পুরো বাংলাদেশে শুধু আমাদের কাছেই পাবেন। ধনিয়া শুকানোর সময় কিছু দামি মশলা ব্যবহার করা হয়। যেমন এলাচি, দারুচিনি, ইত্যাদি ইত্যাদি সবগুলো বলা যাবে না, এটা ব্যবসায়ী কৌশল।আর এটা হোমিওপ্যাথি ডাক্তার ও হাকিম -কবিরাজগন অহরহ করেন। সুতরাং দোষের কিচ্ছু নেই।
তবে হ্যাঁ আমাদের ধনিয়া মিক্স মশলা আপনি একবার খেলে দ্বিতীয়বার অবশ্যই খাবেন। এতে বিন্দু মাত্র সন্দেহের অবকাশ নেই, আপনি অবশ্যই খাবেন।
এই মশলা ঝাল মুড়ি, চটপটি থেকে নিয়ে মাছ গোস্ত, ভাজি, সবজি সব ধরনের রান্নার সাথে ব্যবহার করতে পারেন। এর দ্বারা রান্না খুব টেষ্টি ও মুখরোচক হয়।

আমি মনে করছেন যে, দাম একটু বেশি তাই না? না ভাইয়া, দয়া করে এমন মনে করবেন না। আপনার থেকে সিমিত লাভ নেওয়া হচ্ছে। কারণ মরিচ কেনার পর ৪ দিন শুকানো লাগে, এখানে ওজন কমে যায় এর সাথে যুক্ত হয় ভাঙানোর খরচ। মিলে নেওয়া - আনার খরচ। বিষয়টি ভালো করে অনুধাবন করতে হলে বাজারে গিয়ে শুকনো মরিচের দাম জিজ্ঞেস করলে বুঝতে পারবেন। হলুদ, জিরা ইত্যাদি এসব আমরা নিজেরা পরিস্কার করে ভাঙাই।

আমাদের সফলতার ১০ বছর:
আমাদের দোকানে উপরোক্ত পন্যগুলো প্রায় ১০ বছর যাবত অত্যন্ত সুনামের সাথে আমরা বিক্রি করে আসছি। আল'হামদুলিল্লাহ এপর্যন্ত ভেজালের ব্যাপারে কোন অভিযোগ আসেনি। আপনারা চাইলে একবার খেয়ে পরিক্ষা করে দেখতে পারেন।

বিশুদ্ধতা ও বিশ্বস্তার অনন্যাতায়।       যোগাযোগ করুন--
মোসার্স মামুন ডিপার্টমেন্টাল স্টোর
বটতলা কাঁচা বাজার, (তালতলা)টাঙ্গাইল।
যোগাযোগ 01764299654
বিকাশ পেমেন্ট 01721996113 
বিকাশ 01994015227 (পার্সোনাল)

এটাউন্ট নাম্বার :
Md Rashedul Islam 
Dutch Bangla Bank 
Tangail branch 
Ac.19615197962

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর অগ্রীম পৌর - ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রস্তুত হচ্ছেন প্রার্থীরা

ঝিনাইদহের  কোটচাঁদপুর অগ্রীম  পৌর - ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রস্তুত হচ্ছেন প্রার্থীরা




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 
( ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি) 





অগ্রীম আগামী পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক না হলেও ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর  উপজেলার১ টি পৌর সভা ৫ টি ইউনিয়নে বইছে নির্বাচনী মৃদু হাওয়া। চলছে আগাম নির্বাচনের প্রস্তুতি ও নানান জল্পনা-কল্পনা। তবে গত নির্বাচনের তুলনায় এ নির্বাচনে একাধিক চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদ প্রার্থীর প্রাণবন্ত উচ্ছ্বাসে সরগরম হয়ে উঠছে বিভিন্ন চায়ের দোকান, হোটেল-রেস্তোরাঁ, হাটে, ঘাটে, মাঠে ও নিজ বাসাবাড়িতেও,  প্রতিটি এলাকার জনসাধারণের কদর বাড়তে শুরু করেছে, নির্বাচনে অংশ গ্রহণকারিরা হিসাব করতে শুরু করেছেন ব্যক্তিগতভাবে কে কতটা পারফরম্যান্স করেছেন,কতটা জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন,কে কতটা জনবান্ধব, আগামীতে কিভাবে নির্বাচনে নিজেকে উপস্থাপন করবেন। ইতোমধ্যে নতুন-পুরাতন নির্বাচনমুখী হওয়া ইচ্ছুক ব্যক্তিদের স্ব স্ব এলাকায় ঘনঘন আনাগোনা দেখা যাচ্ছে, যেখানে সেখানে দেখা হলে সালাম বিনিময় করছেন , ব্যানার ফেস্টুনের মাধ্যমে বিভিন্ন উৎসবে ও বিশেষ বিশেষ দিনে ইউনিয়ন বাসিকে শুভেচ্ছা অভিনন্দন জানাচ্ছেন। জনসাধারণকে খোঁজখবর নিচ্ছেন, কেউ অসুস্থ হলে ফলমূল নিয়ে দেখতে যাচ্ছেন, হাসপাতালে এলাকার কোন রোগী ভর্তি হলে তার সার্বিক খোঁজখবর নিচ্ছেন, চিকিৎসা বাবদ অর্থ সহায়তা করছেন, কোথাও কোনো সমস্যা হলে যথাযথ সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করছেন, কোন হামলা মামলা হলে বুঝিয়ে শুনিয়ে তা দ্রুত মীমাংসা করার চেষ্টা করছেন, কেউ কোন সমস্যার কথা জানালে তা যথা সম্ভব তাৎক্ষনিক ভাবে মিটিয়ে দিচ্ছেন, কোন পরিবারের ছেলেমেয়েরা অর্থাভাবে লেখাপড়া না করতে পারলে খরচ বহন করার প্রতিশ্রুতি সহ নানান প্রতিশ্রুতি জোয়ারে ভাসিয়ে দিচ্ছেন প্রার্থীরা, চায়ের দোকান বা বিভিন্ন জায়গায় বসে জনসাধারণের মতিগতি বুঝে নমনীয় প্রাণজল ভাষায় প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। অসহায় ব্যক্তিদেরকে নিয়মিত খোঁজ রাখছেন, কারণ বসত জনসাধারণের বাড়িতে স্বশরীরে যেতে না পারলেও মোবাইল ফোনের মাধ্যমে খোঁজখবর নিচ্ছেন, বিভিন্ন সরকারি অনুষ্ঠানে যোগদানের মাধ্যমে, ত্রাণ বিতরণের মাধ্যমে, খাদ্য সহায়তার মাধ্যমে, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বিভিন্ন পরামর্শের মাধ্যমে নিজেকে তুলে ধরার ইচ্ছা প্রকাশ করছেন, এভাবেই এগিয়ে যাচ্ছেন আগামী নির্বাচনে নতুন-পুরাতন নির্বাচনমুখী একাধিক প্রার্থীরা । অনেকেই মুখ ফুটে না বললেও তাদের কথাবার্তা ও কর্মকৌশলে বোঝা যাচ্ছে তারাও নির্বাচন করবেন, প্রার্থীরা রুচিসম্মত পোশাক পায়জামা-পাঞ্জাবি পরে সুন্দর মিষ্টি আচরণের মাধ্যমে সৎ যোগ্য  ন্যায় নিষ্ঠাবান হিসাবে মানুষকে বোঝানোর চেষ্টা করছেন, ইতোমধ্যে নবাগত কয়েকটি প্রার্থী নির্বাচনে আগাম প্রস্তুতি নিয়ে মাঠে ময়দানে কার্যক্রম চালাতে দেখা যাচ্ছে,নির্বাচনকে সামনে রেখে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিবৃতি দিচ্ছেন, একে অপরের বিরুদ্ধেও দোষ ত্রুটি গুলো জনসাধারণের মাঝে তুলে ধরছেন। লালিত স্বপ্নের সুবর্ণময় দিন যতো ঘনিয়ে আসছে প্রার্থীরা ততো তাড়াতাড়ি নিজেকে গুছিয়ে তোলায় ব্যস্ত হয়ে পড়ছেন। আসছে সামনে নির্বাচন এব্যাপারে   ইউনিয়ন এর একাধিক ব্যাক্তি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সাধারণ ভোটার জানান, আসছে আগামী নির্বাচনে আর ভুল করতে রাজি নই, এই নির্বাচনে দেখেশুনে সৎ যোগ্য শিক্ষিত জনবান্ধব, জনগণের ভালোবাসবে, নিয়মিত খোঁজ রাখবে, জনগণকে যথাযথ মূল্যায়ন করবে, কোন কালক্ষেপণ না করে যথাসময়ে ইউনিয়ন সেবা দিয়ে যাবে আমরা সে ধরণের প্রতিনিধিকেই আমাদের মূল্যবান ভোট প্রদানের মাধ্যমে বেছে নিবো -ইনশাআল্লাহ।

চৌগাছার জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আমরাই আগামীর ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

চৌগাছার জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন  আমরাই আগামীর ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ



চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ সাম্প্রতিক সময়ে  বিভিন্ন সামাজিক এবং সেচ্ছাসেবী সংগঠন দেশ এবং মানুষের কল্যানে  সেচ্ছাসেবী কাজ করে যাচ্ছে। যশোর জেলার চৌগাছা উপজেলাতেও গড়ে উঠেছে বিভিন্ন সেচ্ছাসেবী সংগঠন। আমরাই আগামী এস.এস.সি এবং এইচ.এস.সি লেভেলের শিক্ষার্থীদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত একটা অলাভজনক, অরাজনৈতিক ছাত্রসেবামূলক সংগঠন। আব্দুর রহমান বাধন প্রাথমিক ভাবে সংগঠন প্রতিষ্ঠার কথা ভাবেন, তারপর কাছের বন্ধু এবং ছোট ভাইদের সাথে আলোচনা করেন। সকলে ঐক্যমতে পৌছালে ২০১৮ সালের ৫ই আগষ্ট আনুষ্ঠানিক ভাবে যাত্রা শুরু করে আমরাই আগামী।           
সংগঠন এর কার্যক্রম নিয়ে কথা হয় সংগঠন এর উপদেষ্টা মোঃ আকরামুল ইসলাম এর  সাথে, তিনি বলেন  আমরাই আগামীর সব সময় সমাজের সুবিধা বঞ্চিত অসহায় মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। সংগঠন টি পরিচালনায় আছেন চৌগাছার এক ঝাক মেধাবী তরুন। ইতিমধ্যে সংগঠন টি ফ্রী মেডিকেল ক্যাম্প, ফ্রী ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্প, কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা,বৃক্ষ রোপন, শহর পরিষ্কার কার্যক্রম পরিচালনা সহ বিভিন্ন সফল কার্যক্রম    পরিচালনা করেছে। করোনার এই দূর্সময়ে  জনসচেতনতা সৃষ্টি, মাস্ক বিতরণ, জীবানু নাশক স্প্রে ফ্রী সবজি বাজার পরিচালনা, খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছে। এছাড়া নিয়মিত অসহায় মানুষের বিভিন্ন সমষ্যা সমাধানে সব সময় কাজ করে যাচ্ছে।
সংগঠন এর সভাপতি আজিমুর রহমান সোহান বলেন, আমরাই আগামী সকল ভালো কাজের সাথে ছিল,  আছে আর থাকবে। সমাজের অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং অসহায় সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি।
আমরাই আগামী সংগঠন এর সাধারণ সম্পাদক  মনজুরুল ইকবাল আদর বলেন,  আজ আমাদের সংগঠন এর  ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। করোনার কারনে ক্ষুদ্র পরিসরে সরকারি বিধিনিষেধ মেনে সীমিত আকারে ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করব আর  আমাদের সংগঠন এর  প্রতিষ্ঠা, বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সব আপনাদের সাথে শেয়ার করব।

ঝিনাইদহে আরো ২৯জন করোনায় আক্রান্ত

ঝিনাইদহে আরো ২৯জন করোনায় আক্রান্ত
 


সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা উপজেলা( ঝিনাইদহ) সংবাদদাতাঃ


৫_৮_২০২০ইংতারিখের কোভিড-১৯ এর আপডেট তথ্য 


অফিসিয়াল ভাবে আমাদের কাছে কুষ্টিয়া_ল্যাব ও যশোর_ল্যাব থেকে আরো ৯৩টি_নমুনার_ফলাফল এসেছে যার  ৬৪জন_নেগেটিভ এবং  ২৯জন_নতুন_আক্রান্ত।এগুলো বিগত ২৯/৭/২০২০(আংশিক),৩০/৭/২০২০,৩/৮/২০২০(আংশিক) ইং তারিখের সংগৃহীত নমুনার ফলাফল।


মোট প্রাপ্ত  ফলাফলের ৪০৪৬+৯৩=৪১৩৯
নেগেটিভ_৩১২৩
আক্রান্ত_৯৮৭+২৯=১০১৬

মোট_সংগৃহীত_নমুনার_সংখ্যা_৪৫৪১

উপজেলা_ভিত্তিক_আক্রান্তের_মোট_সংখ্যা 
সদর_৪৬৪+৪=৪৬৮
শৈলকূপা_১১৫+৩=১১৮
হরিনাকুন্ডু_৪০+৩=৪৩
কালীগন্জ_২৬৪+১৫=২৭৯
কোটচাদপুর_৬৯+৪=৭৩
মহেশপুর_৩৫

চিকিৎসক_সহ_স্বাস্থ্যকর্মীদের_মোট_আক্রান্তের_সংখ্যা_৫৬
চিকিৎসক_সহ_স্বাস্থ্যকর্মীদের_মোট_সুস্থতার_সংখ্যা_২৬

​মোট_সুস্থতার_সংখ্যা_৪৫৬+৩১=৪৮৭

উপজেলা_ভিত্তিক_সুস্থতার_সংখ্যা

সদর_১৯৫+৩১=২২৬
শৈলকূপা_৩৯
হরিনাকুন্ডু_২৪
কোটচাঁদপুর_৩৯
কালীগন্জ_১৩০
মহেশপুর_২৯

কোভিড_১৯_হাসপাতালে_ভর্তি_রোগীর_সংখ্যা_২৪

মোট_মৃত্যুর_সংখ্যা_১৭
সদর_৮
শৈলকূপা_৩
কালিগন্জ_৫
কোটচাঁদপুর_১

চিত্র নায়ক সাত্তার এর ইন্তেকাল আজ দাফন

চিত্র নায়ক সাত্তার এর ইন্তেকাল আজ দাফন



আজহারুল ইসলাম সাদীঃ  আশি দশকের জনপ্রিয় চিত্র  নায়ক আবদুস সাত্তার (৭২) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নাইলাহি  রাজেউন)। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় ঢাকার গ্রীন সিটি হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।  

জানা গেছে, আজ বুধবার সকাল ৯টায় নারায়নগঞ্জ শহরের উকিল পাড়া জামে মসজিদে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। তার ইচ্ছা অনুযায়ী তাকে রূপগঞ্জে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

প্রয়াত নায়ক সাত্তারকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গ্রীন লাইফ মেডিকেল কলেজের আইসিইউতে নেয়ার সময় তার মৃত্যু হয়। তিনি এর আগে তিনবার ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়েছিলেন। ২০১৮ সাল থেকে তিনি শয্যাশায়ী। কয়েক বছর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নায়ক সাত্তারের চিকিৎসার জন্য ৩০ লাখ টাকা দিয়েছিলেন। সেই টাকায় তার চিকিৎসা এবং সংসার চলত।

নায়ক সাত্তার দেশের জনপ্রিয় নায়িকা শাবানা, রোজিনা, অঞ্জু ঘোষ, জিনাত, কবিতা, অলিভিয়া, রানীসহ অনেকের সঙ্গে সিনেমা করেছেন।  

তিনি রঙ্গীন রাখাল বন্ধু, রঙ্গীন রূপবান, সাত ভাই চম্পা, আলোমতি প্রেম কুমার, মধুমালা মদন কুমার, সাগর কন্যা, শীষ মহল, ঘর ভাঙ্গা সংসার, জেলের মেয়ে রোশনী, ঝড় তুফানসহ শতাধিক  ছবিতে অভিনয় করেছেন।

ট্রিপল৯-এ কল দিয়ে সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর চর থেকে উদ্ধার হল আটকে পড়া প্রায় ৫০জন শিক্ষার্থী

ট্রিপল৯-এ কল দিয়ে সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর চর থেকে উদ্ধার হল আটকে পড়া প্রায় ৫০জন শিক্ষার্থী



মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধি ঃট্রিপল৯ (৯৯৯)-এ কল দিয়ে সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর চর থেকে উদ্ধার হল আটকে পড়া প্রায় ৫০জন শিক্ষার্থী।
গতকাল সোমবার রাত ১২টার পর বঙ্গবন্ধু সেতু ও যমুনা নদীতে ঈদ আনন্দ ভ্রমণ করতে আসা এসব শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে পুলিশ।
আটকে পড়া শিক্ষার্থীরা জানান, সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার কামুটিয়া গ্রামের প্রায় ৫০ জন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী মিলে ইঞ্জিনচালিত একটি শ্যালো নৌকা নিয়ে বঙ্গবন্ধু সেতু ও যমুনা নদীতে আনন্দ ভ্রমণে রওনা হন। দিনভর নদীতে আনন্দ বিনোদনসহ দুপুরের খাবার গ্রহণ ও সেতু দর্শন করেন শিক্ষার্থীরা।
পরে সন্ধ্যা ৭টা ৩০মিনিটের দিকে বাড়ি ফেরার পথে যমুনা নদীর মাঝে হটাৎ করে  নৌকার ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। অনেক চেষ্টা করেও মেশিন চালু না হওয়ায় রাত ১০টার দিকে সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলাধীন এনায়েতপুরের যমুনা চরের ধুলিয়াবাড়ি এলাকায় আটকা পড়েন শিক্ষার্থীরা।
তারপর শিক্ষার্থীরা জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল দিলে পুলিশ রাত ১২টার দিকে চরে গিয়ে আটকে পড়া শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে। এছাড়া পুলিশি নিরাপত্তায় শিক্ষার্থীদের রাতযাপন শেষে মঙ্গলবার সকালে পরিবারের সঙ্গে কথা বলে নিরাপদে তাদের বাড়ি পৌঁছে দেয়া হয়।
এনায়েতপুর থানার ওসি মোল্লা মাসুদ পারভেজ বলেন, আটকে পড়া শিক্ষার্থীরা জরুরি সেবা ৯৯৯-এ কল দিলে জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে তাদের উদ্ধার করা হয়। তবে কারও কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। সকালে নিরাপদে সবাইকে বাড়ি পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

দূর্বার তারুণ্যের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী উদ্ভোদন করলেন মুহাম্মদ আবু আবিদ

দূর্বার তারুণ্যের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী উদ্ভোদন করলেন মুহাম্মদ আবু আবিদ



 রিয়াজুল করিম রিজভী স্টাফ রিপোর্টার চট্টগ্রাম

 আজ বিকালে চট্টগ্রাম মহানগর হালিশহরে অবস্থিত গরীবে নেওয়াজ উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ প্রাঙ্গনে দূর্বার তারুণ্য কর্তৃক বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী এর উদ্ভোদনী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।অনুষ্ঠান উদ্ভোদন করেন দূর্বার তারুণ্যের স্বপ্নদ্রষ্টা মুহাম্মদ আবু আবিদ।এসময়ে সেখানে অনেকগুলো গাছ রোপন করা হয়।এসকল গাছের মধ্যে ছিল- পেয়ারা, আমলকি,মালটা,গামাড়ি, অর্জুন ও হরিতকী। 

এসময়ে মুহাম্মদ আবু আবিদ বলেন, গাছ লাগাতে ছোট্টবেলা থেকেই ভালো লাগে।যখন আমি খুব ছোট তখনই আমার বাবা আমার হাত দিয়ে গাছ লাগাত।তখন এটা ভালো লাগত না,কিন্তু এখন যখন গাছগুলো ফল দেয়,খুব ভালো লাগে।আরও বেশি ভালো লাগে যখন পরিচয় দিতে পারি এটা আমার হাতে লাগানো গাছ।
সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার এরকম চিন্তা মাথায় আসার পেছনে কোন কারণ ই নেই।তবে এটা ঠিক আমি অনুপ্রাণিত হয়েছি, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রজেক্ট দেখে।পুরো বাংলাদেশেই পর্যায়ক্রমে আমরা এ বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী সম্পন্ন করব।

এসময়ে আরও উপস্থিত ছিলেন অত্র বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য জসীম উদ্দিন ও দূর্বার তারুণ্যের সদস্য নাজমুল, রাহাত,নকিব,আকিব, রবিউল ও আকাশ।

চট্টগ্রামে দূর্বার তারুণ্য নামক এক সামাজিক সংগঠন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে চার মাস।কিন্তু বর্তমানে এর জনপ্রিয়তা বাংলাদেশ ছাড়িয়ে বিশ্বদরবারে পৌঁছে গিয়েছে।এ সংগঠন কর্তৃক আয়োজিত হয় দেশের আলোচিত ফেসবুক লাইভ অনুষ্ঠান যোদ্ধা।
দূর্বার তারুণ্যের কার্যক্রম দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে।কখনও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ, হঠাৎ করে বিরিয়ানির প্যাকেট নিয়ে রাস্তায় নেমে পড়া কিংবা ঈদুল ফিতরে রেডি ফুড মধ্যবিত্তদের বাসায় গোপনে পৌঁছে দেয়ার মধ্য দিয়ে চমক দিয়েছে দূর্বার তারুণ্য দেশজুড়ে।দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকেও তরুণরা যুক্ত হচ্ছে এ সংগঠনের সাথে।

খোরশেদ আলম সুজনকে অভিনন্দন জানালেন রেজাউল করিম চৌধুরী

খোরশেদ আলম সুজনকে অভিনন্দন জানালেন রেজাউল করিম চৌধুরী



রিয়াজুল করিম রিজভী স্টাফ রিপোর্টার চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রশাসক পদে নিয়োগ পাওয়ায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও চসিক মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. রেজাউল করিম চৌধুরী।

সেইসাথে দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত ও ত্যাগী নেতা খোরশেদ আলম সুজনকে মূল্যায়ন করার জন্য সরকারকে ও ধন্যবাদ জানান তিনি।

বীর মু্ক্তিযোদ্ধা এম. মাহাবুবুল আলমের কবর জেয়ারত করলেন এম. রেজাউল করিম চৌধুরী

বীর মু্ক্তিযোদ্ধা এম. মাহাবুবুল আলমের কবর জেয়ারত করলেন এম. রেজাউল করিম চৌধুরী
  



 রিয়াজুল করিম রিজভী স্টাফ রিপোর্টার চট্টগ্রাম
:  চট্টগ্রাম মহানগর ৬নং পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও চসিক ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর লায়ন এম আশরাফুল আলমের পিতা বীর মু্ক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. মাহাবুবুল আলমের কবর জেয়ারত করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক চসিক নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. রেজাউল করিম চৌধুরী।   কবর জেয়ারত শেষে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানোর সময় উপস্থিত ছিলেন ৬নং পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা গোলাম রাব্বানী ফোরকান, এমইএস কলেজের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আব্দুর রাজ্জাক, মো. মিনার,আবিদ খান, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সাহেদুল ইসলাম, ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা জাবেদুল ইসলাম জাবেদ, মহিউদ্দিন মানিক, ছাত্রনেতা মীর মোশাররফ হোসেন জুনায়েদ এবং থানা-ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।

সাতক্ষীরার প্রবীন ডাঃ হজরত আলী আর নেই

সাতক্ষীরার প্রবীন ডাঃ হজরত আলী আর নেই



আজহারুল ইসলাম সাদী, জেলা প্রতিনিধিঃ

মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, কালিগঞ্জ থানা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠকালিন সভাপতি, ৭০’র দশকে সর্বজন স্বীকৃত আদর্শ চিকিৎসক প্রবীন ডাঃ হজরত আলী (৯০) আর নেই।

তিনি আজ মঙ্গলবার (৪ জুলাই) বিকাল ৪টা ৪৫ মিনিটে কালিগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন নিজ বাসভবনে বার্ধক্যজনিত কারণে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না ইলাহি ওয়াইন্নইলাহি রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তিনি ৩ ছেলে, ৪ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন সাতক্ষীরার সকল রাজনৈতিক অঙ্গনের নেতাকর্মীসহ সকল স্তরের মানুষ।

শোক বার্তায় বলা হয়েছে, সাতক্ষীরার চিকিৎসক সমাজের অন্যতম অভিভাবক, ৭১ এর রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ হযরত আলি ১৯৭১ সালে ভারতে আশ্রিত বাঙালি শরণার্থী এবং মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা সেবা দিতেন। এজন্য বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকারের কাছ থেকে তিনি কোনো ভাতা কিংবা সম্মানি নিতেন না।