পটিয়ায় ১৫'শত পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার-১!

 পটিয়ায় ১৫'শত পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার-১!


সেলিম চৌধুরী, পটিয়া ( চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রাম মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর জেলা কার্যালয়ের পটিয়া শাখার একটি টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এক  হাজার ৫'শত  পিস ইয়াবাসহ টেকনাফ উপজেলার এক ইয়াবা পাচারকারীকে আটক করেছে।


সোমবার ২৪ আগষ্ট মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, চট্রগ্রাম খ সার্কেল (পটিয়া) কর্তৃক উপ পরিচালক হুমায়ুন কবির খন্দকার এর নির্দেশনায় পরিদর্শক মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এর নের্তৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে ১ হাজার ৫শত পিচ ইয়াবাসহ পাচারকারীকে হাতেনাতে আটক করে।


আসামি জাফর আলম (৩২), পিতা- অছিউর রহমান, মাতা- কুলছুমা বেগম, সাং- ফুলের ডেইল, হ্নীলা, টেকনাফ- কক্সবাজার।গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে পটিয়া থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন পরিদর্শক মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।এ অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানান।

একটি অসহায় পরিবারের জন্য সাহায্যের প্রয়োজন

 একটি অসহায় পরিবারের জন্য সাহায্যের প্রয়োজন




তুহিন আহমেদ (পটুয়াখালী)  রাঙ্গাবালী প্রতিনিধিঃপটুয়াখালী জেলা রাঙ্গাবালী উপজেলার ২ নং বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের তক্তাবুনিয়া বাজার সংলগ্ন 

#আঃ রাজ্জাক ফরাজী (৭০) পরিবারে সদস্য সংখ্যা ০৯জন। তার দুই ছেলে ও এক মেয়েে সবাইকে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করিয়ে দুই ছেলের কামাই রোজগার দিয়ে অভাব অনটনের সংসার মোটামুটি ভালোই দিন চলছিলো। 

হঠাৎ করে ২০১৪ইং সালে বড় ছেলে মিন্টু ফরাজী মটর বাইকের আগুনে দগ্ধ হয়ে মারা যায়। রেখে যায় স্ত্রী ও দুটি সন্তান।

#দ্বীতিয় ছেলে মোঃ লিমন ফরাজি(৩৪) দুই সন্তানের জনক। তার উপর পরে সংসারে সম্পূর্ণ দ্বায়ভার। মটর বাইক চালিয়ে কোন রকম দিন কেটে যাচ্ছে, ২০১৯ সালের ১৩ই ডিসেম্বর সন্ধ্যায় মর্মান্তিক গাড়ি দূর্ঘটনার শিকার হয়ে তার ডান পা ভেঙ্গে গুড়া গুড়া হয়ে যায় রক্ত চলাচলের তিনটি রগ ছিড়ে যায়। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় দীর্ঘদিন বরিশালে চিকিৎসা চলছিলো তিন তিনবার অপারেশন হয়েছে প্রায় "তিন লক্ষ' টাকা ব্যয় করেও এখন পর্যন্ত পা জোড়া লাগাতে পারেনি। বাড়িতে ঘরের জায়গাটুকু ছাড়া বাহিরে এক শতাংশ জমি নেই তাদের পরিবারের। এখন নতুন করে আবার অপারেশন করতে হবে, তার কাছে ঔষধ কেনার মত টাকাও নেই। কি দিয়ে নতুন করে অপারেশন করাবে? তাই বাধ্য হয়ে নিউজ ও ফেইসবুকে  সহযোগিতা হাত বাড়িয়েছে। 


আপনারা সরাসরি তার মোবাইলে যোগাযোগ করে আপনাদের সহযোগিতার হাত বাড়াতে পারবেন।


মোঃ লিমন ফরাজী, 

মোবাইল নং-01728701126 (বিকাশ) করা।

আরও ৪ দিনের রিমান্ডে প্রদীপ,লিয়াকত, নন্দদুলাল

আরও ৪ দিনের রিমান্ডে প্রদীপ,লিয়াকত, নন্দদুলাল




 আনিস নাঈমুল হক,কক্সবাজারঃকক্সবাজারের টেকনাফে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলী ও এসআই নন্দদুলাল রক্ষিতসহ ৭ পুলিশ সদস্যের আরও ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।



সোমবার (২৪ আগস্ট) কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক তামান্না ফারাহ তাদের এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।


এর আগে বিকেল তিনটায় পুলিশের ওই ৭ কর্মকর্তাকে আদালতে উঠানো হয়। সেখানে অভিযুক্ত ‍পুলিশ সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাবের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার খায়রুর ইসলাম ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত তাদের ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।


উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাক বাহারছড়া চেকপোস্টে নিরাপত্তা চৌকিতে তল্লাশির সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। 

এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় হত্যা ও মাদক আইনে এবং রামু থানায় মাদক আইনে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করে।


হত্যাকাণ্ডের ৫ দিনের মাথায় ৫ আগস্ট সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌসী বাদী হয়ে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে এসআই লিয়াকত, ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ ৯ পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

সিরাজগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন

 সিরাজগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী, জাতীয় শোক দিবস ও২১ আগষ্ট নারকীয় গ্রেনেড হামলা দিবস  উপলক্ষ্যে -আয়োজিত সিরাজগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আলোচনাসভা, দোয়া মাহফিল, বৃক্ষরোপণ ও বৃক্ষ বিতরণ করা হয়েছে।


সোমবার (২৪আগষ্ট) বিকেলে সিরাজগঞ্জ  শহরের শহীদ এম,মনসুর আলী অডিটোরিয়ামে আলোচনাসভাও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা, আলহাজ্ব লতিফ বিশ্বাস।


প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন,  সিরাজগঞ্জ সদর-কামারখন্দ  আসনের সংসদসদস্য  অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মু্ন্না।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন,  সিরাজগঞ্জ পৌরআওয়ামীলীগের সভাপতি হেলাল উদ্দীন ও সঞ্চালনায় ছিলেন,সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব দানিউল হক মোল্লা দানী।


বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,  জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কে,এম,হোসেন আলী হাসান, এ্যাডঃ বিমল কুমার দাস,আলহাজ্ব ইসহাক আলী,সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রিয়াজ উদ্দিন, পৌর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আসাদ উদ্দীন পবলু, শহিদুল ইসলাম ফিলিপস, জেলা আওয়ামী মহিলালীগের সভাপতি সেলিনা বেগম স্বপ্না, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা হাসনা হেনা প্রমুখ।   এসময় জেলা আওয়ামীলীগ ও তার বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে বক্তাগণ শোকাবহ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট  এ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সহ স্ব-পরিবারে নিহদের বিদেহী আত্নার শান্তি কামনা করেন। এবং পলাতক  বাকীখুনীদের বিদেশ থেকে ফেরত এনে শাস্তি দেওয়ার আহবান করে এবং   যারা জড়িত তাদের বিচার  করা জন্য  জানান। এবং  ২১ আগষ্ট  এ নারকীয় গ্রেনেড হামলাকারীদের সকলের বিচার করে শাস্তি দেওয়ার জন্য দাবী জানান।


অনুষ্ঠানের পূর্বে,  মুজিবশত বর্ষ  উপলক্ষে- শহরের মুক্তির সোপান এলাকায় বেশকিছু  বৃক্ষরোপণ করা হয়। এবং বৃক্ষ বিতরণ করেন অতিথি বৃন্দ

ঢাকা জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মনির, সম্পাদক অর্ণব

 ঢাকা জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মনির, সম্পাদক অর্ণব



প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ  ছাত্র ইউনিয়ন, ঢাকা জেলা সংসদের নতুন কমিটি গঠিত হয়েছে। এতে সাভার সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী মনির হোসেন সভাপতি ও সরকারি বাংলা কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বাবলু ইসলাম অর্ণব সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।


বামপন্থী সংগঠনটির দশম জেলা কাউন্সিল অধিবেশন শেষে এ কমিটি ঘোষণা করা হয়। সোমবার সকালে সাভারের বাইপাল ইউনিক এলাকায় অবস্থিত সংগঠনটির নিজ কার্যালয়ে এ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।


২০১৯ সালের ১৮ মে সংগঠনটির সবশেষ জেলা কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এতে সভাপতি হিসেবে আরিফুল ইসলাম সাব্বির ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ফাহিম পবন দায়িত্ব পেয়েছিলেন। বিগত কমিটি প্রায় এক বছর তিন মাস দায়িত্ব পালন শেষ নতুন কমিটির কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করলো।


নবনির্বাচিত সভাপতি মনির হোসেন বিগত জেলা কমিটির সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। অন্যদিকে বাবলু ইসলাম অর্ণব জেলা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।


সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন শাহিন ইসলাম। তিনি ধামরাই বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের শিক্ষার্থী। এর আগে ধামরাই থানা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।


২৩ সদস্যের কমিটিতে সহ-সভাপতি হয়েছেন ফাহিম পবন ও আমিনুল ইসলাম শাকিল

সহ-সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পেয়েছেন খালিদ রাব্বি রেদোয়ান, তানজিয়া তাসনিম ইতি।


এছাড়া দপ্তর সম্পাদক হিসেবে শরিফুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ পদে সাগর আহমেদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক হিসেবে মোহাম্মদ জিসান দায়িত্ব পেয়েছেন।


শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক পদে তাহাম্মেদ আলী, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক পদে রাজন আহমেদ, সমাজকল্যাণ ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে লিমা আকতার আফরিন নির্বাচিত হয়েছেন।,


একইসঙ্গে কমিটিতে সদস্য হয়েছেন ৬ জন। এতে গঠনতন্ত্র অনুসারে বিদায়ী কমিটির সভাপতি আরিফুল ইসলাম সাব্বির ছাড়াও বিদায়ী কমিটির সহ-সভাপতি সাইফুল শাওন, রিদয় আহাম্মেদ, সাব্বির আহমেদ, দিপু আলী ও রহমতুল্লাহ জায়গা পেয়েছেন।


দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল। উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক খায়রুল হাসান জাহিন।

কুমিল্লার হোমনায় মাস্ক না পড়ায় জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত

 কুমিল্লার হোমনায় মাস্ক না পড়ায় জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত




শাহ আলম জজাহাঙ্গীর

ব্যুরো চিফ, কুমিল্লা 


কুমিল্লার হোমনা উপজেলায়  করোনা প্রতিরোধের লক্ষ্যে  মুখে মাস্ক ও স্বাস্থ্য বিধি না মানায় ৩  প্রতিষ্ঠান ও ৭ জনকে ৪ হাজার ৮ শ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। 


আজ সোমবার ২৪ আগস্ট হোমনা থানা পুলিশের  সহযোগিতায়  উপজেলার ঘাড়মোড়া বাজারে   অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী  অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুমন দে ।


এ সময়  উপস্হিত ছিলেন থানার ওসি (তদন্ত)  মো. আমিনুর রসুলসহ সঙ্গীয় ফোর্স । 


পরে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জন সচেতনতার অংশ হিসেবে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার   ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুমন দে বলেন, মাস্ক না পড়ার অপরাধে  জরিমানা করা হয়েছে এবং   ভবিষ্যতে এ অভিযান  অব্যাহত থাকবে ।

ঝিনাইদহে করোনা ও করোনা উৎসর্গ নিয়ে মৃত ৪৪ তম ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন

 ঝিনাইদহে করোনা ও করোনা উৎসর্গ নিয়ে মৃত ৪৪ তম ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃঅসংখ্য ধন্যবাদ, নিজেদের জীবনের মায়া ত্যাগ করে করোনায় মৃত্যুর খবর পাওয়া মাত্রই সেখানে ছুটে যাচ্ছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের দাফন কমিটির সদস্যরা।

আজ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত ৪৪ তম মৃতদেহের দাফন কাফন সম্পন্ন করলো তারা। ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথের নির্দেশনা নিয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক আব্দুল হামিদ খান করে যাচ্ছেনএই মহতি কাজটি। 

মাজেদা বেগম,বয়স-৭৫, স্বামী-মোঃ মোদাচ্ছের হোসেন,গ্রাম- লক্ষীপুর, হাটগোপালপুর, সদর উপজেলা, ঝিনাইদহ । করোনা আক্রান্ত হয়ে গত ১ তারিখ বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতাল শ্যামলী,ঢাকায় ভর্তি হয়। ২৪ রাতে ২ টার দিকে ইন্তেকাল করেন।

মোঃ সাইফুল ইসলাম,  বয়স-৫০, পিতা মৃত-মোঃ আব্দুল বারী জোয়ার্দ্দার, পবহাটি,  ঝিনাইদহ। করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪-০৮-২০২০ তাং বিকাল ৫.৩০ টায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন । তার করোনা উপসর্গ দেখা দিলে ১৭-০৮-২০২০ তাং ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নমুনা দেয়। ২০-০৮-২০২০ তাং নমুনার ফলাফল পজিটিভ আসে। তাকে ঐদিনই ঝিনাইদহ কোভিড-১৯ হাসপাতাল(শিশু হাসপাতা) চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়। অবস্হার অবনতি হলে ২১-০৮-২০২০ তাং রাত ৯.০০ টায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়। তিনি ঝিনাইদহ জজ কোর্টে জারীকারক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।                   

দুটি মৃতদেহ জেলা প্রশাসক জনাব সরোজ কুমার নাথ"র নির্দেশনা অনুযায়ী ও পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন ঝিনাইদহ উপ-পরিচালক মোঃ আব্দুল হামিদ খান এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে দাফনের ব্যবস্থা করা হয় ।

সদর উপজেলার সিনিয়র ফিল্ড সুপারভাইজার আমিনুল ইসলাম এর নেতৃত্বে  ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের লাশ দাফন কমিটির মাধ্যমে নিজ নিজ গ্রামের স্হানীয় গোরস্থানে  বিকাল ৫.০০ টায় ও রাত ৮.৩০ টায় দাফন করা হয়। 

ইসলামিক ফাউন্ডেশন ঝিনাইদহ গঠিত কমিটি এ পর্যন্ত ৪৪জন করোনা আক্রান্ত ও করোনা উপসর্গ মৃত ব্যক্তির লাশ দাফন সম্পন্ন করলো।

হবিগঞ্জে সুকন্তের জন্য নতুন সাইকেল দিলেন এক হৃদয়বান ব্যক্তি

 হবিগঞ্জে সুকন্তের জন্য নতুন সাইকেল দিলেন এক হৃদয়বান ব্যক্তি




লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃসম্প্রতি এক মধ্যবয়সী কুমারী নারীকে নিয়ে সুকন্তর জীবন সংগ্রাম শিরোনামে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর এক হৃদয়বান ব্যক্তি সুকন্ত তন্তবায়ের হাতে একটি নতুন বাইসাইকেল তুলে দিয়েছেন। সোমবার (২৪-আগস্ট) বিকালে ঢাকা দক্ষিন কেরানীগঞ্জের খেজুরবাগ এলাকার বাসিন্দা, বর্তমানে কুমিল্লা ক্যান্টমেন্টে বসবাসকারী আলমগীর হোসেন নামে ওই ব্যক্তি সাংবাদিক মোহা. অলিদ মিয়াকে সাথে নিয়ে দীর্ঘপথ পাড়ি দিয়ে হবিগঞ্জের মাধবপুরে সুরমা চা বাগানের ১০নং সেকশনে সুকন্তের বাড়ীতে যান। 


সুকন্তের জন্য নিয়ে আসা নতুন হিরো সাইকেল ও তার হাতে নগদ কিছু টাকা তুলে দেন। এসময় সুকন্তের ছোটভাই নয়ন তন্তবায়, বাগান পঞ্চায়েত নেতা স্বপন তন্তবায় ও সুধাম তন্তবায় সাইকেল দাতার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। নতুন সাইকেল পেয়ে সুকন্ত ও ছোটভাই বোন মহা খুশি। সুকন্ত তন্তবায় মাধবপুরের সুরমা চা বাগানের ১০নং সেকশনের বাসিন্দা। আরো দশটা নারীর মত গৃহ কিংবা অন্যসব মেয়েলি কাজে নিয়োজিত হতে না পেরে নারীত্বের শৃঙ্খল ভেঙ্গে সাইকেলের হাতল ও প্যাডেল চেপে বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখছেন।


বাবা মনিন্দ্র তন্তবায় ও মা লক্ষী তন্তবায় এর সংসারের বড় মেয়ে সুকান্ত তন্তবায়। জ্যোশ্না তন্তবায় ও সুমিত্রা তন্তবায় নামে ছোট দুটি বোন রয়েছে তার। একমাত্র ভাই নয়ন তন্তবায়সহ পরিবারের সদস্য ৪জন। প্রায় ৬ বৎসর আগে কিছু দিন ব্যবধানে পিতা মাতা উভয় মারা যায় সুকন্তের। ছোট বোন জ্যোশ্নাকে বিয়ে দিলেও সংসারের ঘানি টানতে গিয়ে নিজেকে কারো ঘরের ঘরনি ভাবার স্বপ্ন দেখার সময় পাননি ২১ বছরের সুকন্ত। 


জীবন ও জীবিকার তাগিদে পুরুষ-মহিলা কোন অনুভূতিই মাথায় আসেনা তার। ছোট ভাই বোন নিয়ে খেয়ে পড়ে বেঁচে থাকাটাই একমাত্র উপলব্ধি। একমাত্র ভাই নয়ন তন্ত বায় এর চা বাগানে দৈনিক ১০২টাকা বেতনের কাজে পরিবারের ভরনপোষন সম্ভব হয়না বলেই জীবন সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন। ছোট বেলায় শখের বসে লব্দ করা দ্বিচক্রযান চালানো জীবনের মাঝপথে জীবন বাচানোর।


সংগ্রামে গুরুত্বপূর্ন অংশে পরিনত হয়েছে। লাকড়ি কাটার দা’টি নিজের থাকলেও সুকান্ত ও তার কুড়ায়িত লাকড়ি বহনের দুই চাকার সাইকেলটি নিজের না। জেঠা (বাবার বড় ভাই) স্বরবিন্দু তন্তবায় এর সাইকেটি চেয়ে নিয়ে প্রতিদিন প্রায় ৭কি.মি. প্যাডেল মেরে মাহঝিল এলাকায় গিয়ে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত লাকড়ি কুড়িয়ে সাইকেলের পিছনে বেধে সাইকেল চালিয়ে বাজারে এনে বিক্রি করত। সংগ্রহীত লাকড়ি ১শ থেকে সর্বোচ্চ ১২০টাকা বিক্রি করতে পারে।

সিরাজগঞ্জ সয়দাবাদে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিঃ এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট ব্যাংকিং সেবার শুভ উদ্বোধন

 সিরাজগঞ্জ সয়দাবাদে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিঃ এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট ব্যাংকিং সেবার শুভ উদ্বোধন




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ  সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ১০নং সয়দাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন বাজারে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের এজেন্ট ব্যাংকিং এর আউটলেট ব্যাংকিং সেবার কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।


সোমবার (২৪আগষ্ট) বিকেলে এ কার্যক্রমের উদ্বোধক ও প্রধান অতিথি ছিলেন, সিরাজগঞ্জসদর-কামারখন্দ আসনের সংসদসদস্য অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না।


বিশিষঅতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সয়দাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান  আলহাজ্ব মোঃ নবীদুল ইসলাম,সয়দাবাদ ইউনিয়ন আঃলীগের সভাপতি ও ইউপি সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল আজিজ মন্ডল, যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক রাশিদুল হাসান রাসেদ, ইউপি সদস্য সাইদুল ইসলাম রাজা প্রমুখ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন, মোঃ আব্দুস সামাদ আকন্দ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সিরাজগঞ্জ ডাচ্-বাংলা ব্যাংক এজেন্ট  ব্যাংকিং এর এরিয়া ম্যানেজার নুর-ই -আলম সরকার। সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন, সয়দাবাদ বাজার ডাচ্-বাংলা ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট সেবার তাসফিয়া এন্টারপ্রাইজ এর পরিচালক মোঃ ফিরোজ ইফতেখার। সারা বাংলাদেশে প্রায় সাত হাজারটি ব্যাংকিং পয়েন্টের মাধ্যমে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড তৃণমূল পর্যায়ের মানুষের ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দিতে  অনলাইন বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে অনলাইন সেবা মাধ্যমে শতভাগ নিরাপদ ব্যাংকিং সেবার দিয়ে থাকে। সয়দাবাদ এ এজেন্ট ব্যাংকিং এর সকল প্রকার সেবা সর্বস্তর এর মানুষের সেবা পৌছে দিতে সকাল ৮হতে রাত ৮ পর্যন্ত খোলা থাকবে বলে জানা যায়।

নোয়াখালী নদীতে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া ডুবরির মরদেহ উদ্ধার

নোয়াখালী নদীতে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া ডুবরির মরদেহ উদ্ধার


 

স্টাফ রিপোর্টার : আর.জে মিজানুর রহমান ইমন :নোয়াখালী জেলার দ্বীপ হাতিয়ার মেঘনা নদীতে জাহাজের ইঞ্জিনে আটকে যাওয়া জাল কাটতে নেমে নিখোঁজ হওয়া এক ডুবরির মরহেদ উদ্ধার করা হয়েছে । আজ সোমবার ২৪ই আগস্ট সকালে জাহাজের নিচ থেকে ওই নিখোঁজ ডুবরির মরদেহ উদ্ধার করা হয় ।



নিখোঁজ হয়ে যাওয়া নিহত ডুবুরি হলেন বরিশাল জেলার বানারীপারা উপজেলার বিশাল কান্দি গ্রামের মৃত আনোয়ার হোসেনের  ছেলে মোঃ আল-মামুন 


হাতিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল খায়ের এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন, তিনি আরও জানান গতকাল রবিবার হাতিয়ার নলচিরা ঘাটের পশ্চিম পাশে মেঘনা নদীতে এম.ভি. মিথিলা সালমান-৩  জাহাজের ইঞ্জিনের পাখায় জাল আটকে যায় । পরে ঢাকা থেকে ২ জন ডুবুরি আনা হয় তা কাটার জন্য। তার মধ্যে ডুবুরি মোঃ আল মামুন জাহাজের ইঞ্জিনের পাখায় আটকে যাওয়া জাল কাটতে নদীতে নেমে নিখোঁজ হয়  আজ সকালে নিখোঁজ ওই ডুবরির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে ।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এর আশাশুনি প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

 সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক  এর আশাশুনি প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন ও  ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ


আজহারুল ইসলাম সাদী, জেলা প্রতিনিধিঃসাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার,  প্রতাপনগর ও শ্রীউলা ইউনিয়নের পানিবন্দি এলাকা পরিদর্শন করে, তাদের মাঝে সরকারী ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক।

আজ রোববার  (২৪ আগস্ট) সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল সকাল ১১ টার সময় প্রতাপনগর ইউনিয়ন এবং দুপুর ১ টার সময় শ্রীউলা ইউনিয়নে নৌকাযোগে পরিদর্শন করেন। 

এসময় তিনি সবাইকে ধৈর্য্য সহকারে পরিস্থিতি মোকাবেলা করার আহ্বান জানান।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন সেনাবাহিনী ও পানি উন্নয়ন বোর্ড জরুরি ভিক্তিতে ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধের সংস্করণ কাজ শুরু করবেন।

আর শুস্ক মৌসুমে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ কাজ শুরু  হবে বলে আসস্ত করেন।

এসময় তিনি পানি বন্দি পরিবারের মাঝে সরকারি ত্রাণ সহায়তা বিতরণ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা, শ্রীউলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিল ও প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন প্রমুখ।


সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সাতক্ষীরায় সাম্প্রতিক বৃষ্টিপাত ও নদীতে ভাঙ্গন হয়ে প্লাবিত, ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ২০০ মেট্টিকটন চাউল ও ২ লাখ নগদ টাকা বরাদ্দ করেছে।


উল্লেখ্য গত ২০ ও ২১ আগস্ট একটানা বৃষ্টিপাতে আশাশুনি উপজেলার  শ্রীউলা ইউনিয়নের হাজরাখালি ও খোলপেটুয়া নদীর বাঁধ ভেঙ্গে ২২ গ্রাম ও প্রতাপনগর ইউনিয়নের কপোতাক্ষ নদীর  কুড়িকাউনিয়া, হিজলিয়া,কোলা,চাকলা, হরিশখালি এলাকার বাঁধ ভেঙ্গে ১৭ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

সোমবার যশোরে আরো ৪৬ জন শনাক্ত, সদরের ৩৯

সোমবার যশোরে আরো ৪৬ জন শনাক্ত, সদরের ৩৯




সুমন হোসেন, যশোর জেলা প্রতিনিধি। 

সোমবার যশোরে আরো ৪৬ জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন। এদিনে  যবিপ্রবি থেকে আসা ১শ’৪৪ নমুনার মধ্যে ৪৩ জন ও খুলনা মেডিকেল থেকে আসা ৩৩ নমুনার মধ্যে ৩  জন শনাক্ত হয়েছেন।শনাক্তদের মধ্যে যশোর সদরের রয়েছেন ৩৯ জন। এছাড়া,  কেশবপুরের ৩, ঝিকরগাছার ২, মণিরামপুরের ১ ও অভয়নগরের ১ জন। আজ নতুন ৪৬ জন সহ  এ পর্যন্ত যশোরে মোট শনাক্ত হয়েছেন ২৮শ’’৮৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩৬ জনের। গতকাল আরো ৬১ জন সুস্থ হয়ে যশোরে মোট সুস্থ্ হয়েছেন ১৭শ’৩৬ জন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যশোরের সিভিল সার্জন অফিসের মুখপাত্র ডাক্তার রেহনেওয়াজ রনি। তিনি আরো জানান, শনাক্তদের বাড়ি লকডাউনের কার্যক্রম চলছে।

সিরাজগঞ্জ বেলকুচিতে যানজট নিরসনে আলোচনা সভা

সিরাজগঞ্জ বেলকুচিতে যানজট নিরসনে আলোচনা সভা

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জজেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জ বেলকুচিতে যানজট নিরসনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার দুপুরে বেলকুচি উপজেলা পরিষদ সভা কক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সাজেদুল, পৌর মেয়র বেগম আশানূর বিশ্বাস, থানা অফিসার ইনচার্জ বাহা উদ্দিন ফারুকী, মুকুন্দগাঁতি বাজার বণিক সমিতির সাবেক সহ- সভাপতি আমিরুল ইসলাম, সাংবাদিক গোলাম মোস্তফা রুবেল প্রমুখ।

সভায় বক্তরা তাদের বক্তব্যে মধ্যে দিয়ে বেলকুচি থেকে কিভাবে যানজটের সমস্যা নিরসন করা যায় সে সব বিষয়ে আলোচনা করেন এবং যানজটমুক্ত করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

টাংগাইল জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুকের সহধর্মিণী আর নেই

 টাংগাইল জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুকের সহধর্মিণী আর নেই




ডা.এম.এ.মান্নান 

টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বর্ষীয়ান রাজনীতিবীদ ফজলুর রহমান খান ফারুকের সহধর্মিণী সুরাইয়া বেগম ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। 


 আজ সোমবার,২৪ আগস্ট ২০২০ খ্রি.  বেলা ২ টা ৩৫ রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

মোংলায় টানা বৃষ্টি আর জোয়ারের পানিতে ১৭৬৫ চিংড়ি ঘের তলিয়ে গেছে,ক্ষতি প্রায় ৬ কোটি টাকা

মোংলায় টানা বৃষ্টি আর জোয়ারের পানিতে ১৭৬৫ চিংড়ি ঘের তলিয়ে গেছে,ক্ষতি প্রায় ৬ কোটি টাকা




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা   

কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিপাত ও নদীতে আকস্মিক জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পাওয়া তা বেড়ী বাঁধ এবং রাস্তাঘাট প্লাবিত হয়েছে তলিয়ে গেছে মোংলার বিভিন্ন নিচু এলাকার কয়েক হাজার চিংড়ি ঘের। এতে ভেসে গেছে ঘেরের বাগদা চিংড়িসহ অন্যান্য সাদা মাছও। বৃষ্টি এবং জোয়ারের পানিতে গত দুই তিনদিনে এখানকার প্রায় ১ হাজার ৭৬৫টি চিংড়ি ঘের তলিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন চাষীরা। এতে প্রায় ৬ কোটি টাকার আর্থিক ক্ষয়ক্ষতির আশংকার কথা জানিয়েছেন উপজেলা সিনিয়র  মৎস্য কর্মকর্তা  এ,জেড,এম তৌহিদুর রহমান। ঘের মালিকদের জন্য ক্ষতিপূরণ চেয়ে সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত সুপারিশ পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।


এদিকে ঘেরের বেড়ী বাঁধ ভেঙ্গে এবং তলিয়ে মাছ বের হয়ে যাওয়ার এখন খালি ঘেরই পাহারা দিচ্ছেন ঘের মালিকেরা। সেই সাথে ভেঙ্গে যাওয়া ঘেরের বেড়ী বাঁধ সংস্কারের কাজ করছেন চাষীরা। চাষীরা বলছেন, কয়েকদিনের টানা বৃষ্টির পানি আর সেই সাথে হঠাৎ করে নদীর অতিরিক্ত পানি চাপে তলিয়ে গেছে তাদের একমাত্র উপার্জনের উৎস চিংড়ি ঘের। কিছুদিন আগে আম্পানের তান্ডবেও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে চিংড়ি ঘেরের। সেই ক্ষতি কাটিয়ে উঠার আগেই আবার অতি বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে ঘেরের যে ক্ষতি হয়েছে তা কোনভাবে পুষিয়ে নেয়া সম্ভব নয়।


অপরদিকে কয়েকদিনের টানা বৃষ্টির কারণে কাজ না থাকায় বেকার হয়ে পড়েছেন দৈনন্দিন খেটে খাওয়া দিনমজুরেরা। 



ঝিনাইদহে আনসার আল ইসলামের দুই সদস্য গ্রেফতার মালামাল উদ্ধার

ঝিনাইদহে আনসার আল ইসলামের দুই সদস্য গ্রেফতার মালামাল উদ্ধার





সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহে জেলা প্রতিনিধিঃ



ঝিনাইদহে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন “আনসার আল ইসলাম’র দুই সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের এন্টিটেররিজম ইউনিট (এটিইউ)। গ্রেফতারকৃতরা হলেন সদর উপজেলার সাগান্না মঙ্গলপাড়ার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে ইনামুল হক (২৪) ও মসজিদ পাড়া এলাকার মৃত আহম্মেদ আলীর ছেলে সিরাজুল ইসলাম (২৩)। সোমবার ভোর রাতে তাদের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোন, ২৪টি সিমকার্ড, ৫টি মেমোরিকার্ড এবং বিপুল পরিমান কারেন্টের তার ও বোমা তৈরীর জন্য মোবাইল সার্কিট, মোডিফাইড মোবাইলের চার্জার, হোম মেড রিচার্জেবল চর্ট লাইট, মোবাইলের ব্যাটারী, বৈদ্যুতিক সুইচ উদ্ধার করা হয়। সোমবার দুপুরে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে এ সব তথ্য তুলে ধরা হয়। পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান পিপিএম জানান, গ্রেফতারকৃতরা ইসলামী খিলাফত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে জিহাদী কার্যক্রমে তাদের সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা বেশী শক্তিশালী বোমা তৈরীর বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে গবেষনা করছে। তাদের বিরুদ্ধে ঝিনাইদহ সদর থানায় মামলা হয়েছে।

কপোতাক্ষ নদের উপর বাঁশের সাঁকো ভেঙ্গে যাওয়ায় মানুষের চরম দূর্ভোগ

কপোতাক্ষ নদের উপর বাঁশের সাঁকো ভেঙ্গে যাওয়ায় মানুষের চরম দূর্ভোগ




মোরশেদ আলম

যশোর প্রতিনিধি

যশোর কেশবপুর উপজেলার ত্রিমোহিনী এলাকায় কপোতাক্ষ নদের উপর ঝুকিপূর্ণ বাঁশের সাঁকো রয়েছে।সাঁকোর বাঁশ নষ্ট হওয়ার কারণে সাঁকোটি ভেঙ্গে যাওয়ায় সাধারণ মানুষের মরণফাঁদে পরিনত হয়েছে। তারপরও নিত্য প্রয়োজনীয় কাজের জন্য এলাকার লোকজন ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করছে ভেঙ্গে যাওয়া বাঁশের সাঁকোর উপর দিয়ে। এছাড়া নৌকায় করে পার হচ্ছে অনেক মানুষ।এই সাঁকোর উপর দিয়ে পার্শ্ববর্তী উপজেলা তালা, কলারোয়া, দেওড়া, নাভারণ, শার্শা,বাকড়া, বেনাপোলের ছাত্র-ছাত্রীসহ হাজার হাজার নারী পুরুষ যাতায়াত করে থাকেন। স্থানীয়দের অভিযোগ ভোটের সময় কপোতাক্ষ নদের উপর দিয়ে সেতু করার স্বপ্ন দেখিয়ে নির্বাচনী বৈতরনী পার হন কিন্তু ভোটে পাস করার পর সেতু তৈরি করার কথা আর মনে থাকে না।


স্বাধীনতার ৪৯ বছর পরেও কপোতাক্ষ নদের উপর সেতু নির্মাণের উদ্যোগ কোন এমপি না নেওয়ায় এলাকাবাসীর ক্ষোভ কমছেনা। গুরুত্বপূর্ণ এই সেতুটি নির্মিত হলে কেশবপুর, তালা, কলারোয়া, সাতক্ষীরার লোকজনের জীবনযাত্রা মান পাল্টে যাবে। সাাঁকোর পশ্চিম পাশের লোকজনদের ঝুকি নিয়ে কেশবপুর কলেজ, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র, ব্যাংকসহ অসংখ্য বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে আসতে হয়। কেশবপুরে তাদের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা কেন্দ্রও রয়েছে। মধুকবির জন্মবার্ষিকী প্রতি বছর ২৫ জানুয়ারী সপ্তাহব্যাপী সরকারিভাবে উদযাপন করা হয়। ঐ সময় বাঁশের সাঁকো দিয়ে হাজার হাজার লোকজন পার হয় জাতীয় মেলা উপভোগ করার জন্য। মেলা উপভোগ করতে এসে দূর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ত্রিমোহিনী ও সাগরদাঁড়ি ভায়া তালা কলারোয়া কপোতাক্ষ নদের উপর সেতু নির্মাণ অত্যন্ত জরুরি। কপোতাক্ষ নদের উপর সেতু না থাকায় মানুষ তাদের উৎপাদিত কৃষিপণ্য কাঁধে বা মাথায় নিয়ে বাঁশের সাঁকো পার হয়।  কলারোয়া ও তালা থানার কৃষক অসীম দাস, আব্দুল হালিম, আব্দুল কুদ্দুস, হায়দার আলী, শরিফুল ইসলাম, আব্দুল হান্নান, তরিকুল ইসলাম, জবান আলী, ইউনুস আলী, নজরুল ইসলাম, আব্দুল জলিল, তরিকুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী, রমজান আলী তাদের কষ্টের কথা জানালেন, তারা বললেন সেতু না থাকায় যানবাহনের অভাবে কাদে ও মাথায় করে সবজি, ধান, পাট নিয়ে ত্রিমোহিনী ও কেশবপুর বাজারে যেতে বাধ্য হন। তাছাড়া বর্ষা মৗসুমে এলাকার স্কুল, কলেজ গুলোতে আসতে হয় ১/২ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে বাঁশের সাঁকোর উপর দিয়ে পার হতে হয়। এলাকাবাসী জানান কপোতাক্ষের উপর একটি সেতু নির্মাণ হলে কেশবপুরে সকল প্রতিষ্ঠানসহ বাজারটিও উন্নত হত এবং প্রতিবছর মধুমেলায় জনগনদের দুর্ভোগ পোহাতে হতো না। দেয়াড়া গ্রামের স্থানীয় ইউপি সদস্য ও সাকোর সভাপতি বাবর আলী সরদার মন্টু জানান কপোতাক্ষর উপর সেতুটি  নির্মাণ হলে কেশবপুর, তালা, কলারোয়ার বিভিন্ন পেশার মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হতো না। এলাকাবাসি জানান তাদের স্বার্থে প্রতিবছর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে এই বাঁশের সাঁকোটি সংস্কার করা হয়। মধুকবির স্বপ্নের কপোতাক্ষ নদের উপর একটি সেতু নির্মিত হলে পাঁচটি উপজেলার মানুষের জীবনযাত্রা পাল্টে যাবে।লেয়াকত আলী জমিদার সাংবাদিকদের জানান আমার উদ্দ্যোগে, নাসির শেখ, মৃত আমির সরদারসহ ২০/২৫ জন মিলে ২০০১ সালে ৪ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ২৭৫ ফুট কপোতাক্ষ নদের উপর একটি সাঁকো নির্মাণ করা হয়। ঐ সময় সাঁকো উদ্বোধন করেন এমপি হাবিবুল ইসলাম হাবিব। তিনি উদ্বোধনের সময় সাকোর জন্য ৫০ হাজার টাকা অনুদান দেন।


ব্রিজ টি হলে দেয়াড়া,ত্রিমোহিনী ,সাগরদাঁড়ি চিংড়া বাজার সহ আরও কয়েকটি বাজার উন্নত হবে এবং প্রতিবছর মধুমেলায় জনগণের দুর্ভোগ কমবে। ব্রিজটি তৈরি করার জন্য ভুক্তভোগী জনগণ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। 



দিনাজপুরে ইয়াসমীন ট্রাজেডি দিবসে মহিলা পরিষদের মানববন্ধন কর্মসূচী

দিনাজপুরে ইয়াসমীন ট্রাজেডি দিবসে মহিলা পরিষদের মানববন্ধন কর্মসূচী




মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি ঃ  বিচারহীনতার যে সংস্কৃতি বিরাজ করছে সেটার পরিবর্তন আনতে হবে। নারীর প্রতি সম্মান ও মর্যাদার যে সাংস্কৃতিক ব্যাপার আছে সেটাও নিশ্চিত করতে হবে। এ জন্য পরিবারের মধ্যে সম্পর্কের যে সমীকরণ আছে সেটা বদলাতে হবে, যারা দায়িত্বে আছেন তাদেরকে বিচারহীনতার সঙ্গে আপোষকামীতা বন্ধ করতে হবে। 

২৪ আগষ্ট সোমবার দিনাজপুর প্রেসক্লাব সম্মুখ সড়কে ‘ইয়াসমীন ট্রাজেডি দিবস’ উপলক্ষ্যে দেশব্যাপী সকল ধর্ষণ, হত্যা ও নির্যাতনকারীদের প্রতিহত এবং বিচারহীনতার সংস্কৃতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন কর্মসূচীতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখা আয়োজিত মানবন্ধন কর্মসূচীতে বক্তারা এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি কানিজ রহমান-এর সভাপতিত্বে মানবন্ধন কর্মসূচীতে বক্তারা আরও বলেন, পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে দেশে নারী নির্যাতনের বিচারের হার মাত্র ৩ শতাংশ। ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে এ রকম ঘটনায় বিচারের হার মাত্র ৩ শতাংশ। এই পরিসংখ্যান থেকেই বুঝা যায় নারী নির্যাতনের বিচার প্রক্রিয়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের আন্তরিকতা কতখানি! হয় তাদের সক্ষমতা নেই, না হয় তারা আন্তরিক নয়। এসব ক্ষেত্রে সক্ষমতা বাড়াতে হবে। তারা যেন আন্তরিক হয়, সেই চেষ্টাও করতে হবে। নারী নির্যাতনসহ সকল নির্যাতনের ঘটনায় সুরাহা হতে পারে যখন যারা ওই ঘটনার সুরাহা দেয়ার দায়িত্বে থাকা ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান তাদের দায়িত্ব পালনে আন্তরিক হতে হবে। তাই এগুলো যাদের দায়িত্ব তাদেরকেই আন্তরিকভাবে সকল ধরনের অপরাধের বিচার করতে হবে। বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদিকা রুবিনা আক্তার এর সঞ্চালনায় মানববন্ধন কর্মসূচীতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ড. মারুফা বেগম। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কলেজিয়েট গার্লস্ স্কুল এন্ড কলেজ-এর অধ্যক্ষ হাবিবুল ইসলাম বাবুল, নাগরিক উদ্যোগ এর সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, নাট্য সমিতির সাধারণ সম্পাদক রেজাউর রহমান রেজু, জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক বদিউজ্জামান বাদল, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক সহিদুল ইসলাম, ভৈরবীর পরিচালক রহমত উল্লাহ, প্রগতি লেখক সংঘের সাধারণ সম্পাদক বাসুদেব শীল, কাব্য কুঞ্জ’র সাধারণ সম্পাদক শেখ সগির আহমেদ, মহিলা পরিষদের সহ-সভাপতি মাহবুবা খাতুন, মিনতি ঘোষ, প্রশিক্ষণ গবেষণা ও পাঠাগার সম্পাদক রুবি আফরোজ, অর্থ সম্পাদক রতœা মিত্র, শিক্ষা ও সংস্কৃতি সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা পলি, আন্দোলন সম্পাদিকা গৌরী চক্রবর্তী, সদস্য অনামিকা পান্ডে, নুরুন্নাহার, রোকসানা বিলকিস, সুকলা কুন্ডু, নাজমা বেগম, রেহেনা বেগম প্রমুখ।##

কালীগঞ্জে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতি, টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট

কালীগঞ্জে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতি, টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান।  

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার কাশিপুর গ্রামে মধ্যরাতে বিকাশ এজেন্ট ব্যবসায়ী মেহেদী হাসান বাপ্পির বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।


পরিবারের দাবি, এ সময় ৩ লক্ষ ২০ হাজার নগদ টাকা ও ১৭ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করা হয়েছে। এছাড়াও বাড়িতে থাকা মেহেদী হাসান বাপ্পির বাবা ও মাকে মারধর করা হয়েছে।রোববার দিবাগত রাত তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।


মেহেদী হাসান বাপ্পির বাবা শহিদুল ইসলাম জানান, রাত আনুমানিক ৩ টার দিকে ৭/৮ জনের একটি দল তালা ভেঙ্গে ঘরের মধ্যে প্রবেশ করে আমাদের দুইজনকে মারধর শুরু করে। এরপর মুখ চেফে ধরে হাত-পা বেঁধে ফেলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে। তিনটি ঘরে থাকা প্রায় ৩ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ও ১৭ ভরি স্বর্ণ লুট করে নিয়ে যায়।


মেহেদী হাসান বাপ্পি বলেন, আমি ও আমার স্ত্রী বাড়িতে ছিলাম না। এই সুযোগে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। বাড়িতে থাকা আমার ব্যবসায়ের ৩ লক্ষ ২০ হাজার ও ১৭ ভরি স্বর্ণ লুট করে নিয়ে যায়।


কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ  মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, ডাকাতি হওয়ার এমন খবর জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখছি।

বুধহাটার নওয়াপাড়ায় পানি নিষ্কাশনের জন্য কালভার্ট উন্মুক্ত

 বুধহাটার নওয়াপাড়ায় পানি নিষ্কাশনের জন্য কালভার্ট উন্মুক্ত




আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা ।প্রতিনিধি: আশাশুনির বুধহাটা ইউনিয়নের নওয়াপাড়ায়় অবৈধ ভাবে আটকে রাখা কালভার্টটি পানি নিষ্কাশনের জন্য উন্মুক্ত করলেন ইউনিয়নের ০৪ ওয়ার্ড ইউপি সদস্য রবিউল ইসলাম। গ্ৰামের ১২ টি পরিবারকে জলাবদ্ধতার হাত থেকে মুক্ত করতে গতকাল অবৈধ ভাবে আটকে রাখা কালভার্টটি মুক্ত করেন তিনি। সরেজমিন ঘুরে ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থায় মেম্বারের অগ্রনী ভূমিকা পালনে বুধহাটা ইউনিয়নের ৪ নং ওয়াড নওয়াপাড়া গ্রামের মতিকুল ঢালীর বাড়ির পাশে সরকারি কালভার্টের পানি নিষ্কাশনের পথ অবৈধ ভাবে বন্ধ করায় দীর্ঘদিন যাবদ বন্ধ আরিফুল ইসলাম সহ স্থানীয় ১০/১২ ঘর দীর্ঘ ৫/৬ দিন পানি বন্ধী থাকায় কোন প্রকার কোন ব্যবস্থা না হলে স্থানীয় মেম্বর রবিউল ইসলাম নিজ উদ্দোক নিয়ে স্থানীয় জনগন ও নিজে কাজ করে সকল বাধা বিপত্তি উপেক্ষা করে পানি নিষ্কাশনের সুব্যবস্থা করে দেন। এ ধরনের সমাজ সেবা মুলক কাজে স্থানীয় জনগন মেম্বর রবিউল ইসলামকে অভিনন্দন জানান#

আশাশুনিতে গাঁজাসহ এক আসামী আটক

আশাশুনিতে গাঁজাসহ এক আসামী আটক




আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা   প্রতিনিধি:


আশাশুনিতে পুলিশের অভিযানে (৫০) গ্রাম গাঁজাসহ এক আসামীকে আটক করা হয়েছে। সাতক্ষীরা জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, পিপিএম(বার) এর দিক নির্দেশনায়, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, দেবহাটা সার্কেল মোঃ শেখ ইয়াছিন আলীর তত্ত্বাবধানে, আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির এর নেতৃত্বে আশাশুনি থানা এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে এ এসআই সাইফুল ইসলাম, এ এসআই মোঃ মিলন হোসেনসহ সঙ্গীয় ফোর্স এর সহায়তায় আশাশুনি সদর ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়া নুর ইসলাম সরদারের ছেলে রাহানুল আবেদীন (রাকিব বাবু) (২২) কে রবিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আশাশুনি সরকারি কলেজের প্রিন্সিপাল রুহুল আমিন এর বাড়ির সামনে ইটের সলিং থেকে (৫০) গাম গাঁজাসহ হাতেনাতে আটক করেন। এসংক্রান্তে আশাশুনি থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন এর ১৯(৮)২০২০ মামলা রুজু করা হয়। সোমবার দুপুরে আসামীকে বিচারার্থে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

কিশোর গ্যাং ও মাদক নির্মূলে অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার

 কিশোর গ্যাং ও মাদক নির্মূলে অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার




শিপন,নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি।

নারায়ণগঞ্জে কিশোর গ্যাং এবং মাদক নির্মূলে অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম।


সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ কামরুল ফারুকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী।অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ ইয়াছিন মিয়া, প্রচার সম্পাদক তাজিম বাবু,কাউন্সিলর আরিফুল হক হাসান, জি.এম. সাদরিল, সংরক্ষীত নারী কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম সহ সাংবাদিক ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সদস্যবৃন্দ।


 রাজনীতিবীদ, জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী, অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে মোহাম্মদ জায়েদুল আলম বলেন, আমাদের সন্তানদের আমাদেরকেই ঠিক করতে হবে। পুলিশ আপনাদের সহযোগীতা করতে পারবে। যার ছেলে-মেয়ে তাকেই শামাল দিতে হবে। আমরা যদি নিরপেক্ষভাবে কাজ করি, তাহলেই সম্ভব। আর যদি মনে করেন নিজের ছেলে মাদক খায়, কোন সমস্যা নাই; অন্যের ছেলে খায়, তাকে আগে ধরতে হবে; তাহলে সমস্যা সমাধান হবে না। যদি এই মনোভাব নিয়ে আসতে পারেন, তাহলে আমি কথা দিচ্ছি সিদ্ধিরগঞ্জের দশটা ওয়ার্ড মাদক মুক্ত করতে পারবো। আর নয়তো সারাদিন বক্তৃতা দিয়েও কোন লাভ নাই। যদি আপনারা কাজ করতে চান, সিদ্ধান্ত নেন; আমরা কাজ করবো।

পটিয়াস্থ ওমান প্রবাসী মরহুম জাফর এর মৃত্যুর দ্রুত সুষ্ঠু বিচারের দাবীতে প্রবাসী ক্লাবের উদ্যোগে মানববন্ধন

পটিয়াস্থ ওমান প্রবাসী মরহুম জাফর এর মৃত্যুর দ্রুত সুষ্ঠু বিচারের দাবীতে প্রবাসী ক্লাবের উদ্যোগে মানববন্ধন




সেলিম চৌধুরী বিশেষ প্রতিনিধিঃ- 


চট্টগ্রামস্থ প্রবাসী ক্লাবের উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সম্মুখে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত।


চট্টগ্রাম বিভাগীয় ব্যুরো : ২৩শে আগষ্ট রোজ রবিবার বেলা ১১ টায় চট্টগ্রামস্থ প্রবাসী ক্লাবের উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সম্মুখে এক মানববন্ধন-এর আয়োজন করা হয়।

( উক্ত মানববন্ধনের বিবেচ্য বিষয় ছিল )

*পটিয়াস্থ ওমান প্রবাসী মরহুম জাফর এর মৃত্যুর দ্রুত সুষ্ঠু বিচারের দাবী

*মহামারি করোনার কারনে বিদেশ প্রবাসী বিমান টিকেট হয়রানি নিয়ন্ত্রণের দাবী *কুয়েত সৌদি আরব কাতার, আরব আমিরাত ও বাহারাইন এর আটকে পড়া প্রবাসীর দ্রুত প্রবাসে যাওয়ার ব্যবস্থা। উক্ত মানব বন্ধনটি প্রবাসী ক্লাবের সম্মানিত সভাপতি সি আইপি খন্দকার এম এ হেলাল সভাপতিত্বে সম্পন্ন হয়।সঞ্চালনার করেন শাকিল আরাফাত। এতে বক্তব্য রাখেন উক্ত সংগঠনের সহ-সভাপতি মোঃ সাজ্জাদ হোসেন রনি, সহ-সভাপতি মোঃ সোলাইমান খন্দকার বাদশা, সহ-সভাপতি মোঃ ইসমাইল, সাধারন সম্পাদক মোঃ তারিকুল ইসলাম, সম্মানিত সদস্য মোঃ আব্দুল মান্নান (সৌদি প্রবাসী), মোঃ আব্দুল শুক্কুর (মক্কা মিছফালাহ্), মোঃ রাশেদ (সৌদি), মোঃ আকতার হোসেন (দুবাই), মোঃ বোরহান উদ্দীন চৌঃ (সৌদি আরব), মোঃ সাহেদ (ওমান) হাজ্বী দিদারুল আলম মদিনা, বক্তব্য এর এক পর্যায়ে সভাপতি সি আইপি খন্দকার এম এ হেলাল বলেন আমরা প্রবাসীরা বাংলাদেশের একটি অন্যতম সম্পদ। যাদের রেমিটেন্সের উপর নির্ভর করে বাংলাদেশের উন্নয়ন চাকা। কিন্তু আমাদের এই রেমিটেন্স যোদ্ধাদের এই অমানবিক নির্যাতন কি আমাদের রেমিটেন্স আয় প্রদানের শ্রেষ্ট উপহার? তা না হলে পটিয়াস্থ ওমান প্রবাসী মোঃ জাফর সাহেব এর করুন মৃত্যুর কারন কি? আমাদের প্রবাসী ভাইদের বিমান টিকেট হয়রানি কি আমাদের প্রাপ্য। কেনই বা দেশে আটকে পড়া প্রবাসী ভাইদের দ্রুত প্রবাসে যাওয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে না। আমি সকল প্রবাসী ভাইদের পক্ষ হয়ে আমাদের জননেত্রী মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা মারফতে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে নিবেদন করছি উপরোল্লিখিত দাবী সমূহ সুসম্পন্ন করে আমাদেরকে নিজ দেশের নীতির প্রতি সম্মান প্রদর্শনে বাধিত করিবেন।



জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল্লাহ এর বিরুদ্ধে টাকা না পেয়ে ফাইল রিজেক্টের অভিযোগ

 জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল্লাহ এর বিরুদ্ধে টাকা না পেয়ে ফাইল রিজেক্টের অভিযোগ




লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃএমপিওভুক্তির ফাইল নিয়ে চরম ভুগান্তিতে পড়েছেন, হবিগঞ্জ জেলা উপজেলার বিভিন্ন বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীরা। শিক্ষকদের অভিযোগ-মোটা অংকের ঘুষ দাবি করে সেটি না পেয়ে বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে ফাইল রিজেক্ট করে দিয়েছেন জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ রুহুল্লাহ। এ নিয়ে শুক্রবার রাতে জেলা শিক্ষা ভবনে এসে ভুক্তভোগী শিক্ষক-কর্মচারীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তবে মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলছেন-নিয়ম বহির্ভুত ফাইল গুলো রিজেক্ট হয়েছে।


জানা যায় করোনাকালীন দুর্যোগ মুর্হুতে নতুন এমপিওভুক্ত মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন দেয়ার জন্য গত রমজান মাসে অনলাইনে আবেদন চায় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। কিন্তু এ সময় শিক্ষক কর্মচারীদের আবেদন অগ্রায়ন করতে অধিকাংশ আবেদনকারীর কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করেন জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ রুহুল্লাহ। যাদের কাছ থেকে টাকা পাননি তাদের ফাইল রিজেক্ট করে দেন।


এমনকি কিছু শিক্ষকের কাছ থেকে টাকা নিয়েও ফাইল রিজেক্ট করে দিয়েছেন। এরপর গত জুন মাসে বঞ্চিত শিক্ষক-কর্মচারীরা ২য় বার আবেদনের সুযোগ পেলে এ সময়ও একই আচরণ করেন তিনি। চলতি মাসে  আবারও তারা আবেদন সুযোগ পেলে জেলার বিভিন্ন স্কুল থেকে নতুন এমপিও ও উচ্চতর গ্রেড মিলে প্রায় ২শ’ শিক্ষক কর্মচারী অনলাইনে আবেদন করেন। অনলাইনের প্রাপ্ত আবেদনগুলো যাচাই-বাছাই শেষে অগ্রায়ন করেন বিভিন্ন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারেরা।


কিন্তু গত ২১ আগস্ট ছিল জেলা শিক্ষা অফিস থেকে আবেদন অগ্রায়ন করার শেষ দিন। ঐদিন বিকেলে আবেদনকারী শিক্ষক-কর্মচারীরা জানতে পারেন তাদের অনেকের ফাইল রিজেক্ট হয়েছে। কোনো কোনো শিক্ষক তাদের ফাইল রিজেক্টের কারণ জিজ্ঞেস করলে তিনি কোন সদোত্তর দিতে পারেননি বলে জানান শিক্ষকরা। অথচ ভুক্তভোগী শিক্ষকরা বিভিন্ন কম্পিউটার দোকানে গিয়ে দেখতে পান ফাইল রিজেক্টের কোন কারণ উল্লেখ নেই।


সন্ধ্যায় আবারও শিক্ষক-কর্মচারীরা জড়ো হন শহরের তিনকোণা পুকুর পাড় এলাকায় জেলা শিক্ষা ভবনের সামনে। তবে সেখানে ফাইল রিজেক্টের সঠিক কারণ তিনি বলতে চাননি। হবিগঞ্জ সদর উপজেলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, তরপ উচ্চ বিদ্যালয় রামপুর উচ্চ বিদ্যালয় আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আশেরা উচ্চ বিদ্যালয় বানিয়াচং উপজেলার রন্তা উচ্চ বিদ্যালয় আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়।


নবীগঞ্জের এনএসপি উচ্চ বিদ্যালয় ও আজমিরীগঞ্জের পশ্চিমভাগ উচ্চ বিদ্যালয়সহ অনেক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মচারীর ফাইল রিজেক্ট হয়েছে।

এ ব্যাপারে তরপ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন- ‘তরপ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫ জন শিক্ষক-কর্মচারি আবেদন করেছিলেন। এর মধ্যে ১ জন শিক্ষকের আবেদন বাবদ তিনি জেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ রুহুল্লাহকে মোটা অংকের টাকা দিয়েছেন।


কিন্তু যারা টাকা দেননি তাদের ফাইল তিনি রিজেক্ট করে দিয়েছেন,

বানিয়াচং উপজেলার রন্তা উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক আবু তাহের বলেন- ‘ফাইল রিজেক্টের যে কারণ তিনি উল্লেখ করেছেন তার সঠিক ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি। একই রকম আবেদন করে কয়েকজন শিক্ষকের আবেদন অগ্রায়ন করেছেন আর আমাদের ফাইল রিজেক্ট করেছেন একই উপজেলার বক্তারপুর আবুল খায়ের উচ্চ বিদ্যালয়ও কলেজের


প্রধান শিক্ষক কামাল হুসেন বলেন, জেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ রুহুল্লাহ কারণ ছাড়াই শিক্ষকদের হয়রানি করছেন। আর তিনি শিক্ষকদের কথা শুনতে চান না শুধু নিজে বলতে চান। যে কারণে সমস্যা বেঁধেছে। প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন জানান- ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই ডিইও মোহাম্মদ রুহুল্লাহ শিক্ষকদের হয়রানি করছেন। পাশাপাশি এমপিওভুক্তির নামে তিনি শিক্ষকদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এ ব্যাপারে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ রুহুল্লাহ বলেন।


আঞ্চলিক শিক্ষা অফিস থেকে আমাদের যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে আমি সেই মোতাবেক কাজ করেছি। বিভিন্ন সমস্যার কারণে বেশ কিছু ফাইল রিজেক্ট হয়েছে। তিনি বলেন-ঘুষ চাওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ মিত্যা কারণ নিয়মবহির্ভুত ফাইলগুলো টাকার বিনিময়ে পাঠালেও কোন লাভ হবে না। সুতরাং টাকা চাওয়ার প্রশ্নই উঠে না এছাড়া টাকা চাইলে আমার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে এসে পুকুরে ডুবে জামাইয়ের মৃত্যু

 ঝিনাইদহের শৈলকুপায় শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে এসে পুকুরে ডুবে জামাইয়ের মৃত্যু


 


সম্রাট হোসেন  শৈলকুপা উপজেলা ( ঝিনাইদহ)  প্রতিনিধিঃঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলায় শ্বশুর বাড়ি বেড়াতে এসে পুকুরে ডুবে শাহ আলী (২২) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। রবিবার (২৩ আগস্ট) বিকালে উপজেলার হাকিমপুর ইউনিয়নের খুলুমবাড়িয়া গ্রামে এঘটনা ঘটে। নিহত জামাই পৌর এলাকার আউশিয়া গ্রামে চাঁদ মিয়ার ছেলে।


পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, বিকালে শালিকাকে সাথে করে বাড়ির পাশে পুকুরে গোসল করতে যাই জামাই শাহ আলী। পুকুর অনেক বড় ও গভীরতা বেশী হওয়ায় শখ করে সাতার দিতে গিয়ে ডুবে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ডাক্তার দ্বারা পরীক্ষা করে তার মৃত্যু নিশ্চিত হয়।


শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) জাহাঙ্গীর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পরিবেশ কতটুকু?

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পরিবেশ কতটুকু?


কাজী মোঃ সাজ্জাদ হাসানঃবর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে বড় আতঙ্কের নাম করোনা ভাইরাস (COVID-19)৷ এটা একটি প্রাণঘাতি রোগ৷ এই ভাইরাস বাতাসের মাধ্যমে মানুষের শরীরে প্রবেশ করে ৷ এই ভাইরাসের উৎপত্তি চীনে হলেও  আজ তা গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে ৷ এই ভাইরাসের আক্রান্তের ফলে অনেক উন্নত রাষ্ট্রে ও ভয়াবহতা প্রকাশ পেয়েছে এবং এখনও অবধি এর ভয়াবহতা বিদ্যমান রয়েছে ৷কারণ কোন রাষ্ট্র এখনও অবধি এই ভাইরাসের ওষুধ আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়নি ৷ ক্রমান্বয়ে এই ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে ৷


বর্তমানে এই ভাইরাস বাংলাদেশেও ব্যাপক আকার ধারণ করেছে ৷ যার ফলে দেশের সকল প্রাতিষ্ঠানিক কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে ৷ গত ১৭ই মার্চ থেকে এখন অবধি তা বিদ্যমান রয়েছে ৷


এই ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে এক প্রকার এলিট শ্রেণির লোক আছে যারা দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার ব্যাপারে একমত পোষণ করছেন ৷ যেখানে কি না বাংলাদেশে প্রতিদিন গড়ে ২৫০০ জন লোক আক্রান্ত হচ্ছে এবং ৩৫ জন লোক নিহত হচ্ছেন৷ এই পরিস্থিতির মধ্যে যদি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয় তাহলে আক্রান্ত শিক্ষার্থীর দায়ভার কে নিবে? গত এপ্রিল মাসে বাংলাদেশের একটি বড় পাবলিক পরীক্ষা (এইচ এস সি) হওয়ার কথা ছিল কিন্তু এই ভাইরাসের কারণে তা সম্ভব হয় নি ৷ এখন যদি এই পরীক্ষা নেওয়া হয় তাহলে প্রায় ১৪ লক্ষ শিক্ষার্থীর জীবন হুমকির মুখে পরে যাবে এবং পাশাপাশি কিছু অভিভাবকদেরও৷


যদি এই ভাইরাস শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়ে যায় তখন কি হবে ভেবে দেখেছেন কি? একটু লক্ষ্য করুন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে চলেছিল স্কুল খুলে দেওয়ার তোড়জোড়৷ তবে সাম্প্রতিক এক রিপোর্টে উঠে এসেছে ‘ভয়াবহ’ চিত্র৷ দেশটিতে শুধু গত জুলাইয়ের শেষ দুই সপ্তাহে অন্তত ৯৭ হাজার শিশু প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে শনাক্ত হয়েছে ৷


আমেরিকার একাডেমি অফ পেডিয়াট্রিক্স অ্যান্ড চিল্ডড্রেন্স’স হসপিটাল অ্যাসোসিয়েশনের নতুন এক গবেষণায় এই তথ্য জানিয়েছেন ৷ সুতরাং এই পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পরিবেশ এখনও তৈরি হয়নি ৷

মা-মেয়েকে নির্যাতনের ঘটনায় দুটি তদন্ত কমিটি, আদালতে স্বপ্রণোদিত মামলা

মা-মেয়েকে নির্যাতনের ঘটনায় দুটি তদন্ত কমিটি, আদালতে স্বপ্রণোদিত মামলা




রিয়াজুল করিম রিজভী

চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান


কক্সবাজারের চকরিয়ায় গরু চুরির অপবাদ দিয়ে মা-মেয়েকে রশিতে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অপরদিকে চকরিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত স্বপ্রণোদিত হয়ে একটি মামলা গ্রহণ করে চকরিয়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপারকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার আদেশ দিয়েছেন। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপসচিবের নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) নেতৃত্বে জেলা প্রশাসন আরেকটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। দুই কমিটির সদস্যরা হারবাংয়ের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য শুনেছেন। পুলিশও ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে ঘটনার বর্ণনা নিয়েছেন।


এদিকে সিএনজিচালিত ট্যাক্সিতে করে মা ও মেয়েসহ পাঁচজন মিলে গরু চুরি করার চেষ্টা করেছে— এমন অভিযোগে চকরিয়া থানায় মামলা হলেও প্রশ্ন উঠেছে— সিএনজিচালিত একটি ট্যাক্সিতে চালকসহ পাঁচজন মানুষের সাথে একটি আস্ত গরু কিভাবে তোলা সম্ভব এবং এটা আদৌ বাস্তবসম্মত কিনা— তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। চকরিয়া থানা পুলিশ ঘটনার দায় এড়াতে মা-মেয়েসহ অন্যদের কাছ থেকে জোর করে স্বীকারোক্তি আদায়ের চেষ্টা করছে— এমন অভিযোগও উঠেছে। চকরিয়া থানার বিতর্কিত ওসি হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে এর আগে ক্রসফায়ারে প্রবাসীসহ তিনজনকে ‘হত্যা’র অভিযোগে মামলা হয়েছে।



তবে বিষয়টিকে সরকার গুরুত্বসহকারে দেখছে জানিয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনায় কোনো জনপ্রতিনিধির সম্পৃক্ততা পেলে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। ঘটনা জানার সাথে সাথেই স্থানীয় সরকার বিভাগ কক্সবাজারের উপপরিচালককে (উপ-সচিব) প্রধান করে আমরা তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। তারা কাজ করছেন। তদন্ত প্রতিবেদন পেলেই ব্যবস্থা।’


চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ সনেট জানান, মা-মেয়েকে নির্যাতনের ঘটনায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় কক্সবাজার থেকে পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। দুটি কমিটিই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।


মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে চকরিয়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মো. মতিউল ইসলাম বলেন, ‘বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত চকরিয়া কক্সবাজার স্বপ্রণোদিত হয়ে হারবাংয়ের ভাইরাল হওয়ায় ঘটনায় জনস্বার্থে একটি মামলা নিয়েছেন। সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। নির্দেশ পাওয়ার পর থানার ওসিকে সাথে নিয়ে ভুক্তভোগীদের সাথে কথা বলেছি। যথাসময়ে আমরা তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবো।’


কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরী বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ থেকে সরে রাজনীতি করলে যা হওয়ার তাই হয়েছে। রাজনীতিতে আদর্শ চর্চা থাকলে এমন ঘটনা ঘটতো না। একজন নারী হিসেবে এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মী হিসেবে আমি এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।’


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্থানীয়রা মা-মেয়েসহ ওই পাঁচজনকে মারধর করার পর চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে তাদেরকে রশি দিয়ে বেঁধে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে এনে নিজের চেয়ারের পাশে রক্ষিত বেতের লাঠি দিয়ে তাদের সমানে পেটান। পিটিয়ে ক্লান্ত হয়ে পুলিশের হারবাং তদন্তকেন্দ্রে ফোন করে পুলিশ এনে তাদের হাতে তুলে দেন। নিজের একজন লোক দিয়ে তাদের বিরুদ্ধে গরু চুরির মামলা দায়ের করান। তবে একটা সিএনজিতে পাঁচজন মানুষের সাথে কিভাবে গরুও পরিবহন করায় তার হিসেবে কেউ মিলাতে পারছেন না।

আইসিডি'র প্রতিষ্ঠাতা আশিক এলজি বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর মনোনীত

 আইসিডি'র প্রতিষ্ঠাতা আশিক এলজি বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর মনোনীত

 

মোহাঃ ফরহাদ হোসেন, কয়রা প্রতিনিধিঃ,দক্ষিণ কোরিয়ার ভিত্তিক বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান এলজি ইলেকট্রনিকস বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর- ২০২০ মনোনীত হয়েছেন  ইনিশিয়েটিভ ফর কোস্টাল ডেভেলপমেন্ট   ( আইসিডি) এর প্রতিষ্ঠাতা আশিকুজ্জামান। গতকাল রাজধানীর গুলশানে  এলজি বাংলাদেশের প্রধান কার্যালয়ে  এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাঁকে অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ঘোষণা করেন এলজি বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ডি কে সন। 

 আশিকের বাড়ি খুলনার কয়রা উপজেলায়। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা শেষ করে সুন্দরবন তীরবর্তী উপকূল এলাকার মানুষের উন্নয়নে নিজেকে মনোনিবেশ করেছেন। প্রতিষ্ঠা করেছেন ইনিশিয়েটিভ ফর কোস্টাল ডেভেলপমেন্ট। তাঁর প্রতিষ্ঠিত স্বেচ্ছাসেবীমূলক সংগঠন আইসিডি ব্যতিক্রমধর্মী  সামাজিক কার্যক্রমের জন্য ব্যাপক প্রশংসিত।  বিশেষ করে কয়রা উপজেলার বাঘ বিধবা ও আদিবাসী মুন্ডা সম্প্রদায়ের উন্নয়নে কার্যকরী ভূমিকা রাখছে আইসিডি। বাঘ বিধবাদের টেকসই কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য আইসিডির অনন্য উদ্যোগ প্রশংসনীয়। আদিবাসী মুন্ডা সম্প্রদায়ের শিশুদের শিক্ষা  সহায়তার জন্য স্কুল প্রতিষ্ঠা,  মুন্ডা নারীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি, উপকূলের কিশোরীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ক্যাম্পেইন, সেনেটারি ন্যাপকিন বিতরণ, সুপেয় পানির ব্যবস্থা ও  বিভিন্ন দূর্যোগে জরুরী খাদ্য সহায়তা ইত্যাদি আইসিডি'র উল্লেখযোগ্য চলমান কর্মসূচী।  কোভিড ১৯ ও ঘূর্ণিঝড় আম্পান পরবর্তী সময়ে আইসিডি উপকূলের পানিবন্দী মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে বিভিন্ন সহায়তা করে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। 



এলজি অ্যাম্বাসেডর প্রসঙ্গে আশিকুজ্জামান বলেন,  

"এটি আমার উপর একটি অর্পিত দায়িত্ব। এ দায়িত্ব পালনে সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। শৈশব থেকে আদিবাসী মুন্ডা সম্প্রদায়ের ছেলেমেয়েদের সাথে বেড়ে উঠা। এই বিশেষ জনগোষ্ঠীর প্রতি আমি দায়বদ্ধতা অনুভব করি। ছোটকাল থেকে তাদের জন্য কাজ করছি। এখন বড় পরিসরে কাজ করার সুযোগ এসেছে। এলজি বাংলাদেশ আমার পাশে দাঁড়িয়েছে। আদিবাসী মুন্ডা নারীদের মধ্যে অনেকেই এখন জীবিকার জন্য সুন্দরবনের উপর নির্ভরশীল। কিন্তু তাদের অধিকাংশের নিজস্ব নৌকা নাই। নদীতে নেমে মাছ, কাঁকড়া ধরে জীবিকা নির্বাহ করে। নদীতে কীটপতঙ্গের আক্রমণের ঝুঁকি থাকে। অনেকক্ষণ পানিতে ভিজে  অসুস্থ হবার  আশংকা থাকে। এ বিষয়টি আমাকে দারুণভাবে নাড়া দিয়েছে। এলজি বাংলাদেশের আর্থিক সহায়তায় এমন ৩০ জন বনজীবী মুন্ডা নারীকে নৌকা প্রদান করা হবে। সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।                    

এলজি অ্যাম্বাসেডর প্রোগ্রামে আরো উপস্থিত ছিলেন এলজি বাংলাদেশের কর্পোরেট ব্রান্ডিং হেড মাহমুদুল হাসান, ট্রাই ডিজিটাল বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঈনুল ইসলাম খান  ও K2K Wears International এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইসরাত জাহান।