ঝিনাইদহ প্রিন্স হাসপাতালে ভুল রিপোর্টে ভুল চিকিৎসা!

ঝিনাইদহ প্রিন্স হাসপাতালে ভুল রিপোর্টে ভুল চিকিৎসা!

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : প্রায়ই ভুল রিপোর্টের কারণে সৃষ্টি হচ্ছে আস্থার সংকট।এর অন্যতম কারণ প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারগুলোতে অনভিজ্ঞ মেডিকেল টেকনোলজিস্ট ও সনোলজিস্ট দিয়ে পরীক্ষা করে সরবরাহ করছে। তবে সাধারণ মানুষের এই আস্থাহীনতার অভিযোগ অস্বীকার করে এটি রোগীদের 'লোক দেখানো ফ্যাশন' বলে মন্তব্য করেছেন কতৃপক্ষ।
শৈলকূপার বাসিন্দা আরতি রানি।তলপেটে ও মাজায় তীব্র ব্যাথা নিয়ে চিকিৎসা নিতে আসেন ঝিনাইদহ প্রিন্স হাসপাতালে গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা: মো: আলাউদ্দিনের চেম্বারে।পরে চিকিৎসকের পরামর্শে টেস্ট করাতে যান। তার আল্ট্রাসনোগ্রাফীর স্বাভাবিক রিপোর্ট দেন তারা। পরদিন একই টেস্টের পুরো উল্টো রিপোর্ট দেয় আরেকটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার।
রোগীর ছেলে বলেন, প্রথমে তারা বললেন কোন সমস্যা নেই। কিছু ঔষধ লিখে দিলেন।তখন আমরা কিছুটা স্বস্তিবোধ করছিলাম।কিন্তু ঔষধ খেয়ে মায়ের শারিরীক অবস্থা আরো খারাপ হয়ে গেল।পরবর্তীতে আমরা শহরের সমতা ডায়াগনস্টিক ও ইসলামি ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালে পরীক্ষা করে জানতে পারি প্রিন্স হাসপাতালের ওই রিপোর্ট ভুল ছিল।
ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা: মার্ফিয়া খাতুন বলেন,রোগ নির্ণয়ের ক্ষেত্রে যে সব যন্ত্রপাতির প্রয়োজন সেগুলো বর্তমানে কিছুটা উন্নয়ন করলেও দক্ষ চিকিৎসা প্রযুক্তিবিদের অপ্রতুল্যতা রয়েছে।'
বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন বিএমএ (ঝিনাইদহ) এর নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নেতা জানান, বেশির ভাগ ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার গুলো মান সম্মত নয়। এ ক্ষেত্রে ভুল রিপোর্ট হওয়া স্বাভাবিক।
এ বিষয়ে প্রিন্স হাসপাতালের পরিচালক মো: পাপ্পুর সাথে গণমাধ্যম কর্মীরা যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এটি রোগীদের লোক দেখানো ফ্যাশন। আমাদের রিপোর্ট সম্পূর্ণ সঠিক, আপনি পারলে কিছু করেন।
ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম জানান,আমি জরুরি কাজে এখন ঢাকাতে আছি। ঝিনাইদহে ফিরে বিষয়টি আমি পর্যবেক্ষণ করে জানাতে পারবো।

নওগাঁয় সাংবাদিক এর উপর মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

নওগাঁয় সাংবাদিক এর উপর মিথ্যা মামলার  প্রতিবাদে মানববন্ধন

রহমতউল্লাহ নওগাঁ: নওগাঁর মান্দায় সাংবাদিক শরিফ এর উপর পুলিশের মিথ্যা চাঁদাবাজী মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে স্থানীয় ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসী। সোমবার দুপরে খাঁজা শাহাবুদ্দিন এর সভাপতিত্বে উপজেলার দেলুয়াবাড়ী বাজারস্থ কালিগ্রাম রোডে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এই মানববন্ধনে এলাকার নারী-পুরুষ ও স্থানীয় ব্যাবসায়ীরা অংশগ্রহন করেন।   

মানববন্ধনে প্রায় দুই শতাধিক নারী-পুরুষ ও স্থানীয় ব্যাবসায়ীরা অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সাংবাদিক শরীফ উদ্দিনকে পরিকল্পিতভাবে ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান থেকে উঠিয়ে নিয়ে পুলিশ মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে পুলিশের প্রত্যাহারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন মানববন্ধন কারীরা।

উল্লেখ্য, উপজেলার কালিগ্রাম গ্রামের এনামুল হকের মেয়েকে পাশর্বর্তী কিত্তলী গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম এর ছেলে আরিফুল ইসলাম কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। কু-প্রস্তাবে ওই মেয়ে রাজী না হলে বখাটে যুবক তাকে রাস্তায় জাপটিয়ে ধরে শ্লীলতাহানী করে। এঘটনায় মেয়ের বাবা এনামুল হক বখাটে যুবক আরিফুল কে অভিযুক্ত করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। 

অভিযোগ দায়েরের পর  মেয়ের বাবা বিষয়টি মিমাংসার জন্য সাংবাদিক শরীফের সহযোগিতা কামনা করেন। এর প্রেক্ষিতে সাংবাদিক শরীফ ছেলে পক্ষের সহযোগি শরিফুল ইসলাম এর সহযোগিতা কামনা করলে গত শনিবার (২৭ মার্চ) দেলুয়াবাড়ী বাজারে বসার প্রস্তাব দেন।

সাংবাদিক শরীফ ও ছেলে পক্ষের সহযোগী শরিফুল দেলুয়াবাড়ী বাজারে এসে বসার কথা দেন। বিষয়টি মিমাংসা করতে এসে ছেলে পক্ষের সহযোগী মাদক ব্যবসায়ী শরীফুল নাটকীয় ঘটনা করে থানা পুলিশকে ফোন দিয়ে বলেন, সাংবাদিক শরীফ আমাকে অপহরন করে আটকিয়ে রেখেছে। যা ঘটনার সাথে বাস্তবতার কোন মিল নেই।

এঘটনার  প্রেক্ষিতে পুলিশ মাদক ব্যববসায়ী ও ছেলে পক্ষের সহযোগী শরীফুল বিষয়টি আমলে নিয়ে সাংবাদিক শরীফ কে গ্রেফতার করে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। 
এদিকে পুলিশ বলছেন, অপহৃত মাদক ব্যবসায়ী শরীফুল ইসলাম কে দেলুয়াবাড়ী বাজারের একটি গলি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

যুব খান ফাউন্ডেশন" থেকে হুইলচেয়ার সহায়তা পেল প্রতিবন্ধী মনির

যুব খান ফাউন্ডেশন" থেকে হুইলচেয়ার সহায়তা পেল প্রতিবন্ধী মনির

ডা.এম.এ.মান্নান
টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি:
গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর কর্তৃক নিবন্ধনকৃত যুব খান ফাউন্ডেশন (জেকেএফ) এর পক্ষ থেকে "জেকেএফ প্রতিবন্ধীদের বন্ধু" প্রজেক্ট এর মাধ্যমে প্রতিবন্ধী মোঃ মনির হোসেন কে একটি হুইলচেয়ার প্রদান করা হয়। এর আগে গত বছর ডিসেম্বর মাসে এই প্রতিবন্ধী পরিবারকে ১মাসের খাবার ( চাউল, ডাল, তেল, পেঁয়াজ, লবন) দেওয়া হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন যুব খান ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা দাতা ও উপদেষ্টা মোঃ ইসমাইল খান, উপদেষ্টা হাফেজ মোঃ জিয়াউর রহমান খান, সমন্বয়ক মোঃ সাহেদুজ্জামান সাহেদ ও ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও পরিচালক মোঃ রাইসুল ইসমাইল খান, সদস্য ফইজুল ইসলাম খান শ্রাবন প্রমুখ।

এ সময় ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান বলেন প্রতিবন্ধী দের পাশে দাড়াঁতে যুব খান ফাউন্ডেশন সব সময় কাজ করে যাচ্ছে এবং ভবিষ্যতে আরও এমন অনেক কাজ করার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে।

নিজ জেলাতে সফররত লেখক ভট্টাচার্য্য

নিজ জেলাতে সফররত লেখক ভট্টাচার্য্য

সুমন হোসেন, যশোর জেলা প্রতিনিধিঃবাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য্য বলেছেন, বর্হিবিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে হেফাজত তান্ডব চালিয়েছে। পাকিস্তানি মদদপুষ্টদের সরাসরি অর্থায়নে তারা এ কার্যক্রম চালাচ্ছে। সারাদেশে যেখানেই তারা অরাজকতা চালাবে সেখানেই ছাত্রলীগ তাদের প্রতিহত করবে। এজন্য জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে নির্দেশনা দেয়া আছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।
আজ সোমবার (২৯ মার্চ) সকালে নিজ জেলা যশোর সফরকালে তিনি এ কথা বলেন।
সকাল ১১টার দিকে তিনি যশোর এসে পৌছান। এর আগে শত শত ছাত্রলীগ নেতাকর্মী ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ তাকে অভ্যর্থনা জানাতে শহরের দড়াটানা বকুলতলাস্থ বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালের সামনে অবস্থান নেন। এসময় তারা ছাত্রলীগ সেক্রেটারিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।
পরে পৌন ১২টার দিকে তিনি ব্যক্তিগতভাবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর লেখক ভট্টাচার্য্য জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়েও শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান।
লেখক ভট্টাচার্য্য আরো বলেন, আমরা ছাত্র ও তরুণ সমাজ আসলেই খুব হতাশ। জাতির পিতার নেতৃত্বে আমরা যে স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম; সেই স্বাধীনতার আমরা ৫০ বছর উদযাপন করছি। কিন্তু সেই সময় আমরা দেখতে পাচ্ছি ৭১'র স্বাধীনতা বিরোধী চক্র বাংলাদেশকে খারাপভাবে বর্হিবিশ্বের কাছে উপস্থাপনের চেষ্টা করছে। তারা ৭৫'এ জাতির জনককে হত্যা করে বিশ্বের বুকে আমাদেরকে বিশ্বাসঘাতকের লেবাস লাগিয়ে দিয়েছিলো। ঠিক সেইভাবে আজকে যখন সারা বিশ্ব থেকে সরকার প্রধানরা বাংলাদেশে আসছে, ১০দিন ব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তির উৎসবকে ভন্ডুল করতে ও বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশকে হেয়প্রতিপন্ন করতে হেফাজতিরা উঠেপড়ে লেগেছে।
এসময় তিনি আরো বলেন, একটি অগোছালো অবস্থায় ছাত্রলীগের দায়িত্ব নিয়েছিলাম। এরপর করোনার কারণে সবকিছু থমকে যায়। কিন্তু ছাত্রলীগ বসে থাকেনি, মানবিক ও সামাজিক কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে সাধারণ জনগনকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। যশোরে দুই বছর ধরে কমিটি নেই। তারপরও কিন্তু ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা সাধারণ মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। এটা স্পষ্ট ছাত্রলীগ নেতা হওয়ার জন্য নয় সাধারণ মানুষ ও ছাত্রদের সেবার জন্য দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।
শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদান শেষে লেখক ভট্টাচার্য্য যশোর পৌর নির্বাচনের মেয়র প্রার্থী হায়দার গণি খান পলাশের পক্ষে লিফলেট বিতরণ করেন। এরপর তিনি নিজ গ্রাম মণিরামপুরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়ে যান।

চৌহালীতে উপজেলা পরিষদের মাসিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

চৌহালীতে উপজেলা পরিষদের মাসিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে
চৌহালীতে উপজেলা পরিষদের মাসিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

মোঃ শাকিল আহমেদ, বিশেষ প্রতিনিধি:সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলা-পরিষদের  মাসিক সাধারণ ও আইন শৃঙ্খলা  সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক হোসেনের'র সভাপতিত্বে মাসিক সাধারণ সভা ও

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোছা: আফসানা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত৷ এসময় ছিলেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোল্যা বাবুল আক্তার , উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জেরিন আহমেদ, উপজেলা আরডিও আবু কালাম আজাদ, সমাজ সেবা অফিসার মামুনুর রহমান , উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শামীম জাহিদ তালুকদার, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা (ভা:) অফিসার গিয়াস উদ্দিন, উপজেলা প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম ,খাষকাউলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুর রহমান, ঘোড়জান ইউপি চেয়ারম্যান রমজান আলী, মৎস কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম ও উপজেলা ত্রাণ অফিসার মজনু মিয়া প্রমুখ ৷

উল্লেখ্য, এ সভায় মার্চ মাসের বিভিন্ন উন্নয়নের বিষয় নিয়ে স্ব স্ব চেয়ারম্যান বৃন্দ গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন।

সুবর্ণ জয়ন্তীতে বগুড়া প্রেসক্লাবের ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ৩১ মার্চ

সুবর্ণ জয়ন্তীতে বগুড়া প্রেসক্লাবের ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ৩১ মার্চ

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃবগুড়া প্রেসক্লাব আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে মিডিয়াকাপ টি-১০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আগামী ৩১ মার্চ বুধবার শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।

গতকাল রবিবার প্রেসক্লাব ক্রীড়া উপ কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ চান্দু, শহীদ মাসুদ, শহীদ চিশতি হেলালুর রহমান ও শহীদ আজাদ এর নামে চারটি গ্রুপে ভাগ হয়ে ক্লাব সদস্যরা খেলায় অংশগ্রহণ করবেন।

ক্লাব সদস্য যারা খেলায় নিবন্ধন করেছেন লটারীর মাধ্যমে তাদের চারটি গ্র"পে ভাগ করা হয়েছে। ক্রিকেট টুর্নামেন্টে অংশহণকারি প্রেসক্লাব সদস্যদের ঐদিন সকাল সাড়ে ৮টার মধ্যে স্টেডিয়ামে উপস্থিত হওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। এছাড়া বগুড়া প্রেসক্লাবের সকল সদস্যবৃন্দকে মাঠে উপস্থিত হয়ে খেলা উপভোগ ও খেলোয়াড়দের উৎসাহ প্রদান করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে পটিয়া বরলিয়া আ’লীগের আনন্দ র‌্যালী

স্বাধীনতা দিবস  উপলক্ষে পটিয়া বরলিয়া আ’লীগের আনন্দ র‌্যালী

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ- স্বাধীনতার' ৫০ বছর সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে (২৬মার্চ)পটিয়া উপজেলার বরলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আনন্দ র‌্যালীসড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কর্তলা প্রাথমিক বিদ্যালয় শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন।পরে স্কুল মিলনায়নে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি সুপ্রিয় বড়–য়া'র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা মোহাম্মদ মুরাদ চৌধুরী, মো: জামাল উদ্দিন, মো: এনাম, রিপন বিশ্বাস,দিদারুল আলম, অনুজ বড়ুয়া, সুনিল মল্লিক, উত্তম দাশ, প্রিয়তোষ বড়ুয়া, মো:মহিন, বিটন বড়ুয়া, সজল বড়ুয়া, স্বপন শীল, রিটন বড়ুয়া, রতন দাশ, মো: কায়সার, মো: বেলাল, মো: জাহাঙ্গীর, মো: ফয়েজ, রওশগীর, মো: সিরাজ প্রমুখ।

পটিয়ায় আহনাফ মোরশেদ ক্রিকেটে আল্লাহ্‌ মালিক একাদশের জয়লাভ

পটিয়ায় আহনাফ মোরশেদ ক্রিকেটে আল্লাহ্‌ মালিক একাদশের জয়লাভ

সেলিম চৌধুরী পটিয়া চট্টগ্রামঃ- পটিয়ায় মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সৈয়দ আহনাফ মোরশেদ সাদি স্মৃতি (দিবা-রাত্রি) ক্রিকেট টুর্নামেন্টে জয় পেয়েছে আল্লাহ মালিক ক্রিকেট একাদশ। তারা ২৭ রানে বেলখাইন ক্রিকেট একাদশকে পরাজিত করে। এ উপলক্ষে ২৫ মার্চ রাতে  আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্বে করেন আহনাফ সাদি সৃতি সংসদের সভাপতি এস এম খোরশেদ উল্লাহ।এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বেসরকারি কারাপরিদর্শক সাবেক কেন্দ্রীয় ছাএলীগ নেতা আবদুল হান্নান চৌধুরী লিটন। বক্তব্য রাখেন দৈনিক জনতা'র সাংবাদিক সেলিম চৌধুরী, দৈনিক আজাদীর সাংবাদিক শফিউল আজম, দৈনিক আলোচত বাংলাদেশ এর সাংবাদিক গোলালাম কাদের, বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার পটিয়া উপজেলার সভাপতি রাশেদ বিন কাদের চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মঈনুল ইসলাম খোকন প্রমুখ। উক্ত টুর্নামেন্ট ৩২ টি দল অংশ গ্রহণ করে।  প্রধান অতিথি আবদুল হান্নান চৌধুরী লিটন বলেছেন,সমাজ থেকে কুসংস্কার, অন্যায়-অত্যাচার দূরীকরণে যেমন শিক্ষার বিকল্প নেই, তেমনি মাদকমুক্ত সমাজ গঠনেও খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই। লেখাপড়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা করার সুযোগ করে দিতে হবে। আহনাফ সাদি সৃতি সংসদের সভাপতি ইন্জিনিয়ার এস এম মোরশেদ উল্লাহ বলেন, শিক্ষা ও ক্রীড়া ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে দেচ । পটিয়ার অঞ্চলের অভিভাবকদের বলব, আপনার ছেলেমেয়েদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলুন। আগামী দিনে আধুনিক ও উন্নত বাংলাদেশ গঠনে যেন তারা ভূমিকা রাখতে পারে। তিনি বলেন, আজকের শিক্ষার্থীরাই আগামী দিনে এই দেশকে গড়ে তুলবে। শিক্ষকরা মানুষ গড়ার কারিগর। শিক্ষকদের দায়িত্ব শিক্ষার্থীদের পাঠদানে মনোযোগী করে গড়ে তোলা। খারাপ সঙ্গ ত্যাগ করে শিক্ষার্থীরা যেন ভবিষ্যতে দায়িত্বশীল মানুষ হয়ে উঠতে পারে, সে বিষয়ে শিক্ষকদের খেয়াল রাখতে হবে। লেখাপড়ার পাশাপাশি ছেলেমেয়েদের খেলাধুলায়ও পারদর্শী করে তুলতে হবে। এটা করা শিক্ষকদের দায়িত্ব। সমাজ থেকে মাদক দূরীকরণে সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান তিনি।

কোভিড-১৯ এর সংক্রামনে সরকারের নতুন সিদ্ধান্ত জারি

কোভিড-১৯ এর সংক্রামনে সরকারের নতুন সিদ্ধান্ত জারি

মো সাব্বির হোসেন রকি 
তেঁতুলিয়া (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি: ২৯ মার্চ (সমবার) কোভিড-১৯ এর সতর্কতায়  নতুন প্রঙ্গাপন দিয়েছেন গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার,প্রঙ্গাপনে দেওয়া ১৮টি বিষয়ে গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে। 
প্রঙ্গাপনে আরো বলা হয়েছে এই আদেশ উপরোক্ত বিষয়সমূহ অবিলম্বে সারা দেশে কর্যকর হবে এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত আপাততঃ ০২ (দুই) সপ্তাহ পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

প্রঙ্গাপন নং
 নংঃ০৩.০০.২৬৯০.০৮২.৪৬.০২৫.২০২১-১২৪

করোনাভাইরাস মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ ও সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকারের পক্ষ থেকে দুই সপ্তাহের জন্য ১৮ দফা নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। একই সঙ্গে বেশি সংক্রমিত এলাকায় জনসমাগম নিষিদ্ধসহ রাত ১০টার পর প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের না হতেও বলা হয়েছে। 

নির্দেশনাগুলো হলো:

১. সকল ধরনের জনসমাগম (সামাজিক/রাজনৈতিক/ধর্মীয়/অন্যান্য) সীমিত করতে হবে। উচ্চ সংক্রমণযুক্ত এলাকায় সকল ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হলো। বিয়ে/জন্মদিনসহ যে কোনো সামাজিক অনুষ্ঠান উপলক্ষে জনসমাগম নিরুৎসাহিত করতে হবে। 
২. মসজিদসহ সকল ধর্মীয় উপাসনালয়ে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন নিশ্চিত করতে হবে।
৩. পর্যটন/বিনোদনকেন্দ্র সিনেমা হল/থিয়েটার হলে জনসমাগম সীমিত করতে হবে এবং সব ধরনের মেলা আয়োজন নিরুৎসাহিত করতে হবে। 
৪. গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে এবং ধারণক্ষমতার ৫০ ভাগের অধিক যাত্রী পরিবহন করা যাবে না।
 ৫. সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাতে আন্তঃজেলা যান চলাচল সীমিত করতে হবে, প্রয়োজনে বন্ধ রাখতে হবে।
 ৬. বিদেশ হতে আগত যাত্রীদের ১৪ দিন পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক (হোটেলে নিজ খরচে) কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে হবে। 
৭. নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রী খোলা/উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি পরিপালনপূর্বক ক্রয়-বিক্রয়ের ব্যবস্থা করতে হবে, ওষুধের দোকানে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে হবে।
 ৮. স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানসমূহ মাস্ক পরিধানসহ যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন নিশ্চিত করতে হবে।
 ৯. শপিংমলে ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়েরই যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে হবে।
১০. সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (প্রাক-প্রাথমিক, প্রাথমিক, মাদ্রাসা, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, বিশ্ববিদ্যালয়) ও কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে।
 ১১. অপ্রয়োজনীয় ঘোরাফেরা/আড্ডা বন্ধ করতে হবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া রাত ১০টার পর বাইরে বের হওয়া নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।
১২.  প্রয়োজনে বাইরে গেলে মাক্ক পরিধানসহ সকল ধরনের স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন নিশ্চিত করতে হবে। মাস্ক পরিধান না করলে কিংবা স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘিত হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
 ১৩. করোনায় আক্রান্ত/করোনার লক্ষণযুক্ত ব্যক্তির আইসোলেশন নিশ্চিত করতে হবে। করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে আসা অন্যদেরও কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে হবে। 
১৪. জরুরি সেবায় নিয়োজিত প্রতিষ্ঠান ছাড়া সকল সরকারি-বেসরকারি অফিস! প্রতিষ্ঠান শিল্পকারখানাসমূহ ৫০ ভাগ জনবল দ্বারা পরিচালনা করতে হবে। অন্তঃসত্ত্বা/অসুস্থ/বয়স পঞ্চান্নোর্ধ্ব কর্মকর্তা/কর্মচারীর বাড়িতে অবস্থান করে কর্মসম্পাদনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। 
১৫. সভা, সেমিনার, প্রশিক্ষণ, কর্মশালা যথাসম্ভব অনলাইনে আয়োজনের ব্যবস্থা করতে হবে।
 ১৬. সশরীরে উপস্থিত হতে হয় এমন যে কোন ধরনের গণপরীক্ষার ক্ষেত্রে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন নিশ্চিত করতে হবে।
 ১৭. হোটেল-রেস্তোরাঁসমূহে ধারণক্ষমতার ৫০ ভাগের অধিক মানুষের প্রবেশ বারিত করতে হবে।
১৮. কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ এবং অবস্থানকালীন সর্বদা বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরিধানসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন নিশ্চিত করতে হবে।

হরতাল এবং হত্যা থেকে মুক্তির জন্য লড়ুন : মোমিন মেহেদী

হরতাল এবং হত্যা থেকে মুক্তির জন্য লড়ুন : মোমিন মেহেদী

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী বলেছেন, হরতাল এবং হত্যা থেকে মুক্তির জন্য লড়ুন। দেশকে ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচাতে ঐক্যবদ্ধ হোন। প্রেসিডিয়াম মেম্বার প্রকৌশলী লায়লা হাসান-এর সভাপতিত্বে তোপখানা রোডস্থ কার্যালয়ে ২৯ মার্চ সকাল ১০ টায় অনুষ্ঠিত সভায় তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। বক্তব্য রাখেন প্রেসিডিয়াম মেম্বার অধ্যাপক শুভঙ্কর দেবনাথ, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রী, সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াজেদ রানা, ডা. আনজুমান আরা রাবেয়া প্রমুখ এসময় বক্তব্য রাখেন।

এসময় মোমিন মেহেদী আরো বলেন, নতুন প্রজন্ম সবসময় আলো আর ভালোর রাজনীতির পক্ষে। আর তাই তারা রাজনীতির নামে ধর্ম আর চেতনা ব্যবসা বন্ধের জন্য তারা ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে। ছাত্র-যুব-জনতার রাজনৈতিকধারা নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির পতাকাতলে শামিল হতে ০১৭১২৭৪০০১৫ নম্বরে নাম-ঠিকানা-জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর লিখে এসএমএস করলে ফিরতি কলে সদস্য নাম্বার জানিয়ে দেয়া হবে।  

বিএনসিসির ক্যাডেট আন্ডার অফিসার হলেন নোবিপ্রবি'র দুই শিক্ষার্থী

বিএনসিসির ক্যাডেট আন্ডার অফিসার হলেন নোবিপ্রবি'র দুই শিক্ষার্থী

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোরের (বিএনসিসি)ময়নামতি রেজিমেন্টের ৬ নং ব্যাটালিয়নের সর্বোচ্চ র‌্যাংক ক্যাডেট আন্ডার অফিসার(সিইউও) হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) বিএনসিসি প্লাটুনের ক্যাডেট সার্জেন্ট মো. নুরুল আবছার এবং ক্যাডেট সার্জেন্ট নুসরাত জাহান। তাঁরা যথাক্রমে বিশ্ববিদ্যালয়ের  ব্যবসায় প্রশাসন এবং  বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধ অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষার্থী। 

জানা গেছে, গত রবিবার(২৮ মার্চ)  কুমিল্লায় বিএনসিসির ময়নামতি রেজিমেন্টে অনুষ্টিত হয় সিইউও নির্বাচন পরীক্ষা। লিখিত পরীক্ষা, ড্রিল, কমান্ড, অস্ত্র খোলা ও লাগানো এবং ভাইভা পরীক্ষার মাধ্যমে সিইউও নির্বাচন করা হয় ক্যাডেট আন্ডার অফিসার(সিইউও)। ওইদিন বিকেলে রেজিমেন্ট কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্ণেল সালাউদ্দিন আল মুরাদ জি এবং রেজিমেন্ট এডজুটেন্ট মো. গোলাম সরওয়ার  সিইউও পদে নির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করেন।

নদীর স্রোতে ভেসে যাওয়া জীবিত হরিণ উদ্ধার!

নদীর স্রোতে ভেসে যাওয়া জীবিত হরিণ উদ্ধার!
নদীর স্রোতে ভেসে যাওয়া জীবিত হরিণ উদ্ধার!

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা :মোংলার
 জয়মনি এলাকায় পশুর নদী থেকে একটি জীবিত হরিণ উদ্ধার করেছে জেলেরা। পরে জেলেরা হরণটি বনবিভাগের কাছে বুঝিয়ে দেন। বনবিভাগ হরিণটিকে পুনরায় বনে ছেড়ে দিয়েছে। সোমবার দুপুরের দিকে হরিণটি পশুর নদীর পশ্চিম পাড়স্থ সুন্দরবন থেকে সাঁতরিয়ে/ভেসে পূর্ব পাড়ের লোকালয়ের দিকে যাচ্ছিল। এ সময় পশুর নদীতে থাকা জেলেরা হরিণটিকে উদ্ধার করে। খবর পেয়ে পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের ষ্টেশন কর্মকর্তা মোঃ ওবায়দুর রহমানসহ বনপ্রহরীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছালে জেলেরা হরিণটি তাদেরকে বুঝিয়ে দেন। এরপর হরিণটিকে বনের করমজন বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর পুনরায় বনে ছেড়ে দিয়েছে বনবিভাগ।

পল্লীশ্রী’র উদ্যোগে ৫নং শশড়া ইউনিয়নে আলোচনা সভা, রচনা প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত

পল্লীশ্রী’র উদ্যোগে ৫নং শশড়া ইউনিয়নে আলোচনা সভা, রচনা প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত
আলোচনা সভা, রচনা প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত

মামুনুর রশিদ ,দিনাজপুর প্রতিনিধি
 :মুজিব জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী এবং জাতীয় দিবস-২০২১ উদযাপন উপলক্ষে ২৯ মার্চ সোমবার পল্লীশ্রী নারীর ক্ষমতায়নের জন্য সুযোগ সৃষ্টি প্রকল্প এর আয়োজনে এবং ব্রেড ফোর দ্যা ওয়ার্ল্ড-জার্মানী এর সহযোগিতায় দিনাজপুর সদর উপজেলার ৫নং শশড়া ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া আদর্শ গ্রামে আলোচনা সভা ও রচনা প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এসকল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দিনাজপুর সদর উপজেলার ৫নং শশড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম। আদর্শ গ্রামের সভাপ্রধান ময়না বেগম এর সভাপতিত্বে অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ৫ নং ইউপি সদস্য মোছাঃ নাজমা বেগম, মোঃ খলিলুর রহমান, এলাকা প্রাইমেরি বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ আব্দুল লতিফ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন পল্লীশ্রী'র প্রোগ্রাম অফিসার শাহেজাদী শিরিন এবং সহযোগিতায় ছিলেন পল্লীশ্রী'র প্রোগ্রাম ফ্যাসিলিটেটর কৃষ্ণা দাস।
উক্ত রচনা প্রতিযোগিতায় আদর্শ গ্রামের ২০জন কিশোর-কিশোরী অংশগ্রহন করেন প্রতিযোগিতা শেষে প্রতিযোগিদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।


বাংলাদেশ মেট্রোরেল যুগে প্রবেশ এর পথে!

বাংলাদেশ মেট্রোরেল  যুগে প্রবেশ এর পথে!


মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ বাংলাদেশ মেট্টোরেল যুগে প্রবেশ করতে যাচ্ছে। তাই চলতি বছরের ডিসেম্বরে ঢাকার উত্তরা থেকে আগারগাও পর্যন্ত প্রথম পরীক্ষামূলকভাবে মেট্টোরেল চলাচল শুরু করবে। সেই লক্ষ্যে আগামী ৩০ মার্চ বিদেশ থেকে মোংলা বন্দরে আসছে মেট্টোরেলের ৬টি রেলওয়ে কারের (কোচ) প্রথম চালান। জাপানের কোবে বন্দর থেকে এ কোচ নিয়ে ছেড়ে আসা বিদেশী জাহাজ এম,ভি এসপিএম ব্যাংকক এখন মোংলা বন্দরের প্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে। বিদেশী ওই জাহাজটি মেট্টোরেলের অত্যাধুনিক ও মূল্যবান এ মালামাল নিয়ে মোংলা বন্দরের জেটিতে ভিড়বে।

এরপর বন্দরের ৯ নম্বর ইয়ার্ডে খালাস হবে আমদানীকৃত রেলওয়ে কার। বিদেশী ওই জাহাজের স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনসিয়েন্ট ষ্টিমশীপ কো: লি: এর মহাব্যবস্থাপক মো: ওহিদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরো বলেন, রেলওয়ে কারগুলো জাপানের কাওয়াসাকী হ্যাভী ইন্ডাস্ট্রি কোম্পানী লি: তৈরি করছে। আর এই কোচ আমদানীকারক প্রতিষ্ঠান হলো ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানী লি: (ডিএমটিসিএল)। ২০২১-২০২২ সালের মধ্যে আরো ১৩৮ টি রেলওয়ে কার মোংলা বন্দর দিয়ে আমদানী,ছাড়করণ ও পরিবহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, প্রথমবারের মত মোংলা বন্দর দিয়ে দেশের মেট্টোরেলের রেলওয়ে কার আসছে। এর আগে রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের চুল্লিসহ মূল্যবান যন্ত্রাংশ মোংলা বন্দর দিয়ে এসেছে। এর ফলে দিনে দিনে জাহাজ আগমনের সংখ্যা বাড়ছে এ বন্দরে। এতে এটাই প্রমাণ করে মোংলা বন্দরের সক্ষমতা অনেকাংশে বেড়ে গেছে। এই বন্দরের আরো সক্ষমতা অর্জন ও গতিশীল করতে নতুন নতুন প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। যেগুলো বাস্তবায়ন হলে পুরোপুরিভাবে এই বন্দর আর্ন্তজাতিকভাবে নতুন মাত্রা পাবে।

বন্দর ব্যবহারকারী হোসাইন মোহাম্মদ দুলাল ও ক্যাপেন্ট মো: রফিকুল ইসলাম বলেন, অতীতের যেকোন সময়ের চেয়ে মোংলা বন্দর ব্যবহারে এখন সুযোগ সুবিধা অনেক রয়েছে। বন্দরের নতুন ও আধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপন হওয়ায় এটি ব্যবহারে তারা এখন লাভজনক অবস্থানে আছেন বলেও জানান তারা।

মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে হত্যার অভিযোগ

মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে হত্যার অভিযোগ

নিউজ ডেস্কঃ সাভারের আশুলিয়ায় বাড়িওয়ালার ছেলে রাজা মিয়া (৯) নামের এক শিশুকে অপহরণের পর মুক্তিপণের ৫০ লাখ টাকা না পেয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে ভাড়াটিয়া দম্পতির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মূল অভিযুক্ত আরিফুল ইসলাম পলাতক থাকলেও তার স্ত্রী লিজা আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ। 
রোববার (২৮ মার্চ) রাত ১১টার দিকে আশুলিয়ার টঙ্গাবাড়ি এলাকায় কালাম মাদবরের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাজা ওই এলাকার কালাম মাদবরের ছেলে।

আটক লিজা আরিফুল ইসলামের স্ত্রী। আরিফুল ইসলাম বর্তমানে পলাতক রয়েছে। তিনি পাবনা জেলার আমিনপুর থানার ভাতশাল গ্রামের আজিজ শেখের ছেলে। তারা কালাম মাদবরের বাড়ির দোতলার ভাড়াটিয়া। 
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রোববার সন্ধ্যায় কালাম মাদবরের বাড়ির দোতলার এক ভাড়াটিয়া দম্পতি রাজাকে অপহরণ করে। পরে রাজার মুক্তিপণ হিসেবে ৫০ লাখ টাকা দাবি করে অপহরণকারীরা। বিষয়টি নিয়ে এলাকার ভেতরে জানাজানি হলে ও টাকা দিতে দেরি হলে অপহরণকারীরা রাজাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বস্তাবন্দি করে। পরে সেই বাড়ির চারতলা ছাদ থেকে রাজাকে মাটিতে ফেলে দেওয়া হয়। এ ঘটনার পরপর অপহরণকারী দম্পতির ভেতর স্বামী পালিয়ে গেলেও স্ত্রীকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আল আমিন বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আরিফুল পলাতক থাকলেও তার স্ত্রী লিজাকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
তথ্যের উৎসঃ সময় টেলিভিশন

বগুড়া গাবতলীতে অগ্নিশিখা কেড়ে নিলো ৪বছরের শিশুর জীবন

বগুড়া গাবতলীতে অগ্নিশিখা কেড়ে নিলো ৪বছরের শিশুর জীবন

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃবগুড়া গাবতলী উপজেলা  সোনারায় ইউনিয়নের সাবেক পাড়ায় ভয়াবহ অগ্নিকুণ্ডে ৪ বছরের এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় তিনটি পরিবারের আসবাবপসহ আগুনে পুড়ে গেছে। স্থানীয় সুত্রে জানাজায় গত শনিবার দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে বগুড়া গাবতলীর সাবেক পাড়া গ্রামের দিন মজুর রফিকল ইসলামের বাড়িতে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সুত্রপাত ঘটে। এই আগুনের লেলিহান শিখার কারণে রফিকুল রফিকুলের দুই ছেলে হালিম ও করিমের ঘরবাড়ি  আসবাবপত্রসহ সহায়সম্পদ আগুনে পুড়ে যায়। অগ্নিকান্ডে দগ্ধ হয়ে পুড়ে মারা যায় রফিকুল ইসলামের ৪ বছরের শিশুপত্র রাফি। গ্রামবাসি আগুনের লেলিহানশিখা টের পেয়ে হৈ-চৈ করে আগুন নেভানো জন্য চেষ্টা চালায়। ততক্ষণে ঘুমন্ত ৪ বছরের শিশুপুত্রসহ সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। গ্রামের কিছু সংখ্যক লোক ৯৯৯ নাম্বারে কল করে গাবতলী ফায়ার সার্ভিস কে অবহিত করলে। ঘটনাস্থলে গাবতলী ফায়ার সার্ভিস  ইউনিট টিম পৌঁছানো আগেই এলাকাবাসী প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণ আনে। ততক্ষণে সব আগুনে পুড়ে ছায় হয়ে যায়। অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনার স্থান পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী সকর্মকতা মোছাঃ রওনক জাহান এবং মৃত্যু শিশুটির সৎকারের বাবদ নগদ ১০হাজার টাকা প্রদান করেন। পাশাপাশি  ক্ষতিগ্রস্তের পাশে সকল কে আর্থিক সহায়তার হাত দাড়ানোর আহবান জানান।

ঝিনাইদহে যৌতুকলোভী স্বামীর নির্যাতনে অজ্ঞান স্ত্রীকে উদ্ধার করলো পুলিশ

ঝিনাইদহে যৌতুকলোভী স্বামীর নির্যাতনে অজ্ঞান স্ত্রীকে উদ্ধার করলো পুলিশ

 খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, খুলনা ব্যুরো প্রধান:সারা শরীরের কালশিটে দাগ। চোখের কোনায় জমাট বাধা রক্ত। মুখগহব্বরে গভীর ক্ষত নিয়ে বাকরুদ্ধ। মুমুর্ষ অবস্থায় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে কাঁতরাচ্ছেন দুই সন্তানের জননী শারমিন আক্তার। যৌতুক ও মাদকাসক্ত স্বামী শিমুল জোয়ারদারের অকথ্য নির্যাতনে তিনি গুরুতর অসুস্থ। শরীরের এমন কোন স্থান নেই যেখানে আঘাত করা হয়নি। মাদকাসক্ত স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ের প্রতিবাদ ও নিয়মিত নেশার টাকা দিতে না পারায় এমন নিষ্ঠুর ও নির্দয় ভাবে মারধর করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার গোয়ালপাড়া গ্রামে। শারমিন আক্তার ঝিনাইদহ শহরের বুলু মিয়া সড়কের কাজী কবির ইসলামের মেয়ে। শারমিন অভিযোগ করেন, নয় বছরের দাম্পত্য জীবনে নানা ভাবে অত্যাচার নির্যাতনের মাঝেও শিশু সন্তান খুশবু ও আব্দুল্লাহর মুখের দিকে তাকিয়ে স্বামীর ভিটে আঁকড়ে ছিলাম। সম্প্রতি আরো যৌতুকের জন্য স্বামী শিমুল জোয়ারদার চাপ দিতে থাকে। সেই সঙ্গে শারমিনের শ্বশুর আব্দুর রহিম জোয়ারদারও বকাঝকা ও মরধর করতেন। কিন্তু আমার পিতা অতিশয় গরীব। মেয়ের সুখ-শান্তির কারণে বিয়ের সময় দুই লাখ ও বিয়ের ছয় মস পরে আরো এক লাখ টাকা প্রদান করেছিলেন। এদিকে টাকা না দেওয়ায় পরিবারের প্ররোচনায় গ্রামেই আবার দ্বিতীয় বিয়ে করে শিমুল। শারমিন অভিযোগ করেন, সংসারে সতীন আসার কারণে আমার উপর নির্যাতন আরো বেড়ে যায়। গত বুধবার রাতে শিমুল জোয়ারদার ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী সাগরিকা আক্তর বুলবুলি আমার রুমে ঢুকে বেধড়ক মারপিট করে। সতীন বুলবুলি আমাকে ধরে রাখে আর স্বামী শিমুল ও দেবর রাজু জোয়ারদার মারপিট করতে থাকে। নির্যাতনের এক পর্যায়ে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। খবর পেয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার এসআই পলাশ আমাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে শনিবার ঝিনাইদহ সদর থানায় নির্যাতিত গৃহবধু শারমিন আক্তার একটি এজাহার করেছেন। ঝিনাইদহ সদর থানার এসআই পলাশ ঘটনার সত্যতা শিকার করে বলেন, মেয়েটিকে আমি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। তার উপর অকথ্য নির্যাতন করা হয়েছে। তিনি বলেন মামলা রেকর্ড হলে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

বড়লেখায় হেফাজতের বিক্ষোভ মিছিল

বড়লেখায় হেফাজতের বিক্ষোভ মিছিল
বড়লেখায় হেফাজতের বিক্ষোভ মিছিল
আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় বাংলাদেশ হেফাজতে ইসলামের ডাকে দেশব্যাপী হরতালের সমর্থনে রবিবার (২৮ মার্চ) পৌর শহরে শান্তিপূর্ণ  মিছিল সমাবেশ  করেছে হেফাজতের নেতাকর্মীরা। 

সকাল থেকেই পৌর শহরের অবস্থা শান্তিপূর্ণ ছিল এবং সকল প্রকার যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক ছিল। এদিকে দক্ষিণ বাজারের নুরজাহান শপিং সেন্টারের সামনে থানা অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদারের নেতৃত্বে পুলিশের সতর্কতা অবস্থান থাকতে দেখা গেছে।

বেলা ৩ ঘটিকার সময় বড়লেখা কেন্দ্রীয় মসজিদের সামনে থেকেই উত্তর বাজার পদক্ষিণ করে ইসলামীয়া বিল্ডিং এর সম্মুখে এক শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা।

সাবেক ছাত্র মজলিসের জেলা সভাপতি ফখরুল ইসলামের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন হেফাজত নেতা মাওলানা কাজী এনামুল হক, মাওলানা ছালেহ আহমদ, মাওলানা ফখরুল ইসলাম, মনসুর আহমেদ, সাইফুর রহমান প্রমুখ।

পুকুরে বিষ দিয়ে ২ লাখ টাকার মাছ নিধন

পুকুরে বিষ দিয়ে ২ লাখ টাকার মাছ নিধন



কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ 

কুড়িগ্রামের উলিপুরে পুর্ব শত্রুতার জেরে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার মাছ মারা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে, শনিবার ভোর রাতে উপজেলার তবকপুর ইউনিয়নে।
অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই ইউনিয়নের দক্ষিণ সাদুল্যা মাইলডাঙার পাড় গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে মৎস্য চাষী শিপুল মিয়া বাড়ির পার্শ্বে ৩০ শতক পুকুরে দীর্ঘদিন ধরে মাছ চাষ করে আসছেন। প্রতিদিনের মত শুক্রবার রাত ১টার দিকে শিপুল বাড়িতে এসে ঘুমিয়ে পড়েন। পরে রাতের কোন এক সময় দুর্বৃত্তরা তার পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে। সকালে সব মাছ মরে ভেসে ওঠে। পুকুরটি বিলে হওয়ায় বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার মাছ মারা যায়।
ভুক্তভোগী শিপুল মিয়া বলেন, আমি দীর্ঘদিন ধরে নিজের এবং অন্যের পুকুর লিজ নিয়ে মাছ চাষ করে আসছি। একটি মহল বিভিন্নভাবে আমার এবং আমার পরিবারের ক্ষতি করার জন্য পায়তারা করে আসছে। গত ২ বছর আগেও তারা আমার পুকুরে বিষ দিয়ে প্রায় লক্ষাধিক টাকা ক্ষতি করেছে।
উলিপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন বলেন, মাছ নিধনের ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।