হবিগঞ্জ জেলায় ডিজিটাল আইনে ২ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা আন্দোলনের ডাক,

হবিগঞ্জ জেলায় ডিজিটাল আইনে ২ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা আন্দোলনের ডাক,




লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি 

হবিগঞ্জে জেলায় ২ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলা আন্দোলনের ডাক, সরকারি ক্ষমতার অপব্যবহার করে অনিয়ম-দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিভিনś গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ করেছিলেন হবিগঞ্জের বেশ কয়েকজন সাংবাদিক। এর জেরে দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছেন বানিয়াচং উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলম। এ নিয়ে তীব্র সমালোচনা চলছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় হয়ে অনেকেই বলছেন, 

অবিলম্বে ওই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। একইসঙ্গে ওই কর্মকর্তার দুর্নীতি বের করতে হবে। প্রতিবাদ জানাচ্ছে সাংবাদিক সমাজও। ইতোমধ্যেই মামলা প্রত্যাহারে আন্দোলনের ডাক দিয়েছে সাংবাদিকদের বিভিনś সংগঠন।
গত ১৫ মার্চ ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলাটি দায়ের করেন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলম। 

এতে আসামি করা হয় মাছরাঙা, টেলিভিশনের হবিগঞ্জ প্রতিনিধি চৌধুরী মো. মাসুদ আলী ফরহাদ ও বাংলানিউজের ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বদরুল আলমসহ আরও কয়েকজনকে। মামলাটি তদন্তের জন্য অপরাধ তদন্ত বিভাগে (সিআইডি) পাঠিয়েছেন আদালত। মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলম এক কর্মস্থলে টানা দীর্ঘদিন চাকরির সুবাধে বিভিনś দুর্নীতির সঙ্গে জড়িয়ে গেছেন, এমন অভিযোগ এনে 

এবং প্রতিকার চেয়ে দুর্নীতি দমন কমিশন ও মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে আবেদন করে স্থানীয় লোকজন। এর সূত্র ধরে বিভিনś স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়। পরে হবিগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে কয়েকজন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার আবেদন করেন আলম। কিন্তু এখতিয়ার বহির্ভূত হওয়ায় মামলাটি খারিজ করে দেন আদালত। পরবর্তীকালে তিনি 

ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে উল্লিখিত দুই সাংবাদিককে জড়িয়ে মামলা দায়ের করেন। মৎস্য কর্মকর্তার মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে ইতোমধ্যে হবিগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবে জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। একই সঙ্গে শনিবার (২৭-জুন) মানববন্ধন কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়েছে হবিগঞ্জ টিভি জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে। এ দিন বেলা ১১টায় হবিগঞ্জ 

প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে। এতে সর্বস্তরের সাংবাদিকদের অংশ নেওয়ার আহźান জানিয়েছেন তারা। এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সাংবাদিক ফোরমের সভাপতি মো. এমদাদুল ইসলাম সোহেল বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মৎস্য কর্মকর্তার দায়ের করা মামলাটির অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। 

অবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় আমরা আরও বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেব। হবিগঞ্জ টিভি জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রাসেল চৌধুরী বলেন, অবিলম্বে এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। পাশাপাশি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিও জানিয়েছেন তিনি।
হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি মো. ইসমাইল হোসেন বলেন, 

বিষয়টি নিয়ে জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটিতেও আলোচনা হয়েছে। বাক-স্বাধীনতা রোধ ও সাংবাদিকদের হয়রানি করার উদ্দেশে মৎস্য কর্মকর্তা এই মামলা দায়ের করেছেন বলে আমরা মনে করি। অবিলম্বে এ মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে।

করোনা ভাইরাসের মহামারীতে জবি ছাত্রলীগ নেতার উদ্যোগে বিনামূল্যে বই বিতরণ

করোনা ভাইরাসের মহামারীতে জবি ছাত্রলীগ নেতার উদ্যোগে বিনামূল্যে বই বিতরণ





জবি প্রতিনিধিঃ 
বৈশ্বিক মহামারি  করোনা ভাইরাসের কারণে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘ প্রায় তিন মাস অবরুদ্ধ হয়ে আছে। এমন অবস্থায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়সহ (জবি) সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা নিজ বাসা-বাড়িতে  অবস্থান করছে। গৃহবন্দী অলস সময়কে কাজে লাগাতে এবং জ্ঞানের ধারাকে শানিত করতে জাতির পিতা শেখ মুজিব, মুক্তিযুদ্ধ ও শেখ হাসিনার রাজনৈতিক জীবন দর্শন, সংগ্রামের আপোষহীন ইতিহাস, বাঙালীর জন্য আত্মত্যাগ ও বিসর্জন  সম্পর্কে জানার বিকল্প নেই। এই কার্যক্রমকে বাস্তবায়িত করতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য্য'র অনুমতিক্রমে বই উপহার দিচ্ছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম আকতার হোসাইন। কার্যক্রমের শুরুতে জবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমানকে বই দিয়ে দিয়ে শুরু করেন।  পরে রেজিস্ট্রার, কন্ট্রোলার, প্রক্টর, শিক্ষক সমিতি নীলদল এবং প্রতিটি বিভাগের চেয়ারম্যানদের মাঝে বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা সম্পর্কিত বই বিতরণ করেন।


বই বিতরন সম্পর্কে ছাত্রলীগ নেতা এস এম আকতার হোসাইন বলেন, যে কোন সংকটে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশে ছিল এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। এই করোনা ভাইরাসেও ছাত্রলীগ সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে বিভিন্ন ইতিবাচক কর্মকান্ড পরিচালনা করছে। এরই ধারাবাহিকতায় করোনা ভাইরাসের মহামারীতে গৃহবন্দী সময়কে কাজে লাগাতে শিক্ষক, সাধারণ শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের মাঝে জাতির পিতা শেখ মুজিব, মুক্তিযুদ্ধ ও শেখ হাসিনার রাজনৈতিক জীবন দর্শন, সংগ্রামের আপোষহীন ইতিহাস, বাঙালীর জন্য আত্মত্যাগ ও বিসর্জন  সম্পর্কিত বই বিনামূল্যে বিতরনের উদ্যোগ নিয়েছি। এরই মাঝে জবি শিক্ষকদের মাঝে বই বিতরণ করেছি। যারা চাচ্ছে বই দেওয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তথা জাতির পিতার জীবন দর্শন এবং শেখহাসিনার নেতৃত্ব সম্পর্কে জানার বিকল্প নেই। তিনি সবাইকে বাংলাদেশের ইতহাস তথা আওয়ামী লীগের ইতিহাস সম্পর্কিত বই পড়ার জন্য আহ্বান করেন।

মধুপুরে ৭ বছরের শিশু ধর্ষণ হাসপাতালে চিকিস্যাধীন ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা

মধুপুরে ৭ বছরের শিশু ধর্ষণ হাসপাতালে চিকিস্যাধীন ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা



 
মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ
 
টাঙ্গাইলের মধুপুরের গোলাবাড়ী ইউনিয়নের মাঝিরা গ্রামের খালপাড় এলাকায় ৭ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় গত ২৪ জুন বুধবার সন্ধায় মধুপুর উপজেলার মাঝিরা গ্রামের ভূট্রো মিয়ার লম্পট ছেলে রাসেল (১৮) একই বাড়ীর ২য় শ্রেণীর ছাত্রীকে চিপসের লোভ দেখিয়ে বাড়ির পাশে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে। শিশুটির চিৎকারে লোকজন ছুটে আসলে লম্পট রাসেল পালিয়ে যায়।

ঘটনার পর আহত অবস্থায় শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে মধুপুর হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তার অবস্হার অবনতি দেখে উন্নত চিকৎসার জন্য  টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন বলে জানা যায়। এদিকে ঘটনার পরই রাসেলকে তার বাবা মা পালিয়ে যেতে সহযোগিতা করেছে বলে এলাকা সুত্রেজানা যায়। ঘটনার পর হতে এলাকার নামধারী মাতাব্বরগন ঘটনাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার অনেকেই জানান।

ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় ব্যপক চাঞ্জল্যের সৃষ্টি হলেও স্থানীয় মাতাব্বরদের দাপটে এলাকার লোকজন চুপ করে আছেন। ঘটনার সূত্রে জানা যায় শিশুটি অসুস্থ থাকার দরুণ ধর্ষিতার পরিবারটি মামলার প্রস্তুতি নিতে বিলম্ব হচ্ছে । এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য মোঃ মোতালেব হোসেনের সাথে যোগাযোগ করলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন মেয়েটি প্রতিবন্ধিও তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। ঘটনার পর হতে ধর্ষণের শিকার শিশুটির পরিবার একই বাড়ি হওয়ায় স্থানীয় মাতাব্বরদের চাপে আতঙ্কে রয়েছে বলেও জানা যায়।

ইকো নেটওয়ার্ক জবি টিমের উদ্যোগে ভার্চুয়াল সেমিনার

ইকো নেটওয়ার্ক জবি টিমের উদ্যোগে ভার্চুয়াল সেমিনার




জবি প্রতিনিধিঃ
ইকো নেটওয়ার্ক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) টিমের উদ্যোগে 'ন্যাচার, ইকুসিস্টেম এন্ড হ্যাজার্ডস: সাস্টেইনেবল এপ্রুচ" বিষয়ের উপর অনলাইন সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে।


২৬ জুন (শুক্রবার) রাত ৮ টায় সেমিনারটি শুরু হবে যা ইকু নেটওয়ার্ক এর অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজে লাইভে সম্প্রচার করা হ‌বে।


অনুষ্ঠানে বক্তা হিসেবে থাকবেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মনিরুজ্জামান। অনুষ্ঠানে বক্তা হিসেবে আরও থাকবেন একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ আব্দুল কাদের। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় থাকছেন ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও ইকু নেটওয়ার্কের সদস্য তাহজিবা মাসুদ।



এবিষয়ে ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মনিরুজ্জামান বলেন, ইকো নেটওয়ার্ক পরিবেশ সংক্রান্ত তরুণদের নিয়ে একটি ভলেনটিয়ার অর্গানাইজেশন। সেমিনারে প্রকৃতি, ইকোসিস্টেম ও দূর্যোগ এই তিনটার সাথে সম্পর্ক করে কীভাবে পরিবেশেকে সহনীয় পর্যায়ে রাখা যায় এবং দূর্যোগের সময় সহাবস্থান নিশ্চিত করা যায় এইসব বিষয় গুলো উপস্থাপন করা হবে। চলমান করোনা মহামারির সময়ে পরিবেশগত পরিবর্তন নিয়ে আলোচনা করতেই এই আয়োজন।


উল্লেখ্য যে, যৌথভাবে ইকো নেটওয়ার্ক দ্বারা সংগঠিত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় জলবায়ু ও দুর্যোগ স্টাডি ইউনিট (জেএনইউ-সিডিএসইউ) এবং ঢাকা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউট (ডিআইডিএম) এ সেমিনারটি আয়োজন করেছে।

কুড়িগ্রামে মাদক বিরোধী অভিযানে আটক ৪

কুড়িগ্রামে মাদক বিরোধী অভিযানে আটক ৪




কৃষ্ণ সরকার পীযূষ, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রামের উলিপুরে ১০৯ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়েরের পর কুড়িগ্রাম জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তেতে বুধবার গভীর রাতে উপ-পরিদর্শক মশিউর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন স্থান থেকে বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের সাদির গ্রামের আব্দুল লফিতের পূত্র নাজমুল হুদা(২০) ও দূর্গাপুর ইউনিয়নের সরকার পাড়া গ্রামের ছলিম উদ্দিনের পূত্র জিয়া (৩৫)কে ৩৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ আটক করেন। পরে তাদের দেয়া তথ্যমতে দূর্গাপুর ইউনিয়নের সরকার পাড়া গ্রামের ছোবহান আলীর পূত্র মোন্নাফ আলী(৫০) ও মোন্নাফ আলীর পূত্র আলম মিয়া(৩০)কে ৭৪ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে মাদক বিক্রির কাজে ব্যবহৃত দুইটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। 

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়েরের পর কুড়িগ্রাম জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

কিশোরীগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নারী রোগীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ

কিশোরীগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নারী রোগীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ




মো:  লাতিফুল  আজম
কিশোরগঞ্জ  নীলফামারী  প্রতিনিধি :

নীলফামারী জেলার কিশোরীগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক নারী রোগীর যৌন হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে হাসপাতালের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগকৃত (আউটসোসিং) নুরুজ্জামান(২৬) বিরুদ্ধে। গতকাল বৃহস্পতবিার(২৫ জুন/২০২০) রাতের এ ঘটনায় আজ শুক্রবার(২৬ জুন/২০২০) সকালে ওই নারী রোগীকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।
জানা যায়, গত ২০ জুন স্বামীর নির্যাতনের শিকার হয়ে উপজেলার সদরের একটি গ্রামের গৃহবধু হাসপাতালে ভর্তি হন। ওই নির্যাতনের ঘটনায় পুলিশ ওই গৃহবধুর স্বামীকে গ্রেফতার করে জেলহাজাতে প্রেরন করে। গৃহবধু উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ওই গৃহবধুকে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ প্রাপ্ত স্টাফ নুরুজ্জামান মিয়া যৌন হয়রানী করে। মেয়েটির চিৎকার শুনে হাসপাতালে আসা রোগীর এক স্বজন এগিয়ে গেলে নুরুজ্জামান মেয়েটিকে ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়।
হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীর স্বজন সুজন মিয়া সাংবাদিকদের জানান, আমার বোনের বাচ্চা মেডিকেলে ভর্তি রয়েছে আমি তাঁকে দেখার জন্য হাসপাতালের ভিতর যাওয়ার সময় মেয়েটির চিৎকার শুনে এগিয়ে গিয়ে দেখি হাসপাতালের স্টাফ নুরুজ্জামান মেয়েটির সঙ্গে ধস্তাধস্তি করছে। পরে আমি এগিয়ে গেলে নুরুজ্জামান মেয়েটিকে ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়।
ওই নারী রোগী ঘটনার সত্যতা শিকার করে সাংবাদিকদের বলেন, আমার মোবাইলে চার্জ ছিলনা। মোবাইল চার্জ করে দেয়ার নামে আমাকে নিচে গিয়ে আমার হাত ধরে একটি ছেলে টানা হ্যাচড়া করে।
এ ব্যাপারে হাসপাতালে স্টাফ নুরুজ্জামানের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বললে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমি আপনাদের সাথে কোন কথা বলতে পারবনা।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতা আবু শফি মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, হাসপাতালে কিছু বহিরাগত ছেলে ঝামেলা করছিল তাই পুলিশকে ফোন দিয়েছিলাম। পুলিশ আসার পর বহিরাগতরা চলে গেছে। বহিরাগতরা কেন এসেছিল জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি এ বিষয়ে কিছু জানিনা। নারী রোগীকে যৌন হয়রানীর বিষয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনাটি আমার জানা নেই। তবে বিষয়টি তদন্ত করে দেখবো। ওই নারী রোগীকে আজ শুক্রবার ছাড়পত্র দেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন সুস্থ্য হওয়ায় তাকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।

চকপুর- সিধাখালি - কৃষ্ণপুর খালের উপর ৪ কোটি ২৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ব্রীজ উদ্বোধন

চকপুর- সিধাখালি - কৃষ্ণপুর খালের উপর ৪ কোটি ২৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ব্রীজ উদ্বোধন




 রাজু আহমেদ, নাটোর:
নাটোরের সিংড়া উপজেলার শেরকোল ইউনিয়নের চকপুর-সিধাখালি - কৃষ্ণপুর খালের উপর ৪ কোটি ২৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৮০ মিটার দৈর্ঘ ব্রীজের নির্মান কাজের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন উদ্বোধন করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি।

শুক্রবার বিকেল ৩ ঘটিকায় তিনি ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে যুক্ত হয়ে উদ্বোধন করেন। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন, শেরকোল ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুল হাবিব রুবেল।

আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট  সাইদুর রহমান সৈকত, শেরকোল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হযরত আলী, সাধারন সম্পাদক তৌহিদুর রহমান প্রমূখ।


সিংড়ায় ৩ টি প্রাইমারী স্কুলের ভবন উদ্বোধন

সিংড়ায় ৩ টি প্রাইমারী স্কুলের ভবন উদ্বোধন



রাজু আহমেদ, নাটোর: 
নাটোরের সিংড়া উপজেলার 
এলজিইডির আওতায় তিনটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন উদ্বোধন করেছেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী আলহাজ এড জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি। 

শুক্রবার সকালে উপজেলার বড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, নিমাকদমা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও গোয়াল বাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী পলক।

সিংড়া এলজিইডি অফিস জানায় ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে বড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ৭২ লাখ টাকা,নিমাকদমা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ৫৩ লাখ টাকা এবং গোয়াল বাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ৭৮ লাখ টাকা ব্যয়ে এই তিনটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভবন নির্মান করা হয়।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চৌগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম ভোলা, নাটোর জেলা পরিষদের সদস্য সালাহ উদ্দিন আল আজাদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা হক রোজী, উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন, প্রতিমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী সচিব রঞ্জিত কুমার সহ অন্যরা।


নওগাঁয় মেয়রসহ নতুন ৮৩ জনের করোনা শনাক্ত

নওগাঁয় মেয়রসহ নতুন ৮৩ জনের করোনা শনাক্ত





 রাজশাহী ব্যুরো
নওগাঁয় পৌর মেয়র নজমুল হক সনিসহ পৌরসভার ৫ কর্মকর্তা-কর্মচারী, দুই চিকিৎসক, তিন পুলিশ ও স্বাস্থ্যকর্মীসহ নতুন করে ৮৩ জনের নমুনায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। গত ৫ দিনেও করোনা পরীক্ষার কোন ফলাফল পাওয়া না গেলেও শুক্রবার একসঙ্গে ২৭৯ টি নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। 
প্রাপ্ত ফলাফলে জেলায় একদিনে সর্বোচ্চ করোনা আক্রান্তের রের্কড এটি। এনিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৩২৩ জনে দাঁড়িয়েছে। 

নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নওগাঁ পৌরসভার মেযর নজমুল হক সনি, ২ চিকিৎসক, ৩ পুলিশ সদস্য ও একজন সিনিয়র নার্স রয়েছেন। শুক্রবার দুপুরে নওগাঁর সিভিল সার্জন ডা. আকন্দ মো. আখতারুজ্জামান আলাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নতুন ৮৩ জন রোগীর মধ্যে সদরে ৪৬ জন, মহাদেবপুরে ১৪ জন, রাণীনগরে ২জন, পত্মীতলায় ২জন, ধামইরহাটে ৩ জন, মান্দায় ৬ জন, পোরশায় ৩ জন, বদলগাছীতে ৫ জন, সাপাহার ও আত্রাইয়ে ১ জন করে রয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে ১১১ জনকে। এদের মধ্যে সদর উপজেলায় ৬৪ জন, রাণীনগর উপজেলায় ৪ জন, মহাদেবপুরে ৯ জন, বদলগাছি উপজেলায় ৩ জন, পত্মীতলায় ২৫ জন, ধামইরহাট উপজেলায় ৪ জন, নিয়ামতপুরে ১ জন এবং সাপাহার উপজেলায় ১ জন। একই সময়ে হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে ৮২ জনকে। এ পর্যন্ত মোট ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে ৮ হাজার ৬৯৪ জনকে। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১ হাজার ৪৩৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩ জন এবং এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ২০৫ জন। এদিকে এ পর্যন্ত পরীক্ষার জন্য নমুনা পাঠানো হয়েছে ৫ হাজার ১৬৬টি। এর মধ্যে ৪ হাজার ২৬৪ জনের নমুনার পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া গেছে। এপর্যন্ত মারা গেছেন ৪ জন।

নওগাঁয় ১১৭ পিচ ইয়াবাসহ দুই মাদক কারবারি আটক

নওগাঁয় ১১৭ পিচ ইয়াবাসহ দুই মাদক কারবারি আটক





 মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
  রাজশাহী ব্যুরো

১১৭ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ২মাদক কারবারিকে আটক করেছে নওগাঁ জেলা ডিবি পুলিশ।

শুক্রবার (২৬ জুন) ভোররাতে নওগাঁ শহরের বাইপাস তালতলি এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন, নওগাঁ সদর উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের মৃত জামান প্রামাণিকের ছেলে রাজু প্রামাণিক ও শেখ পুরা উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত আজিজার রহমানের ছেলে আশরাফুল ইসলাম মিঠু (৩৮)।

নওগাঁ জেলা ডিবি পুলিশের ওসি কেএম শামসুদ্দিন জানান, এসআই মিজানুর রহমান মিজানের নেতৃত্বে এএসআই গোলাম রব্বানী এএসআই সোহেল রানা সংগীয় ফোর্সসহ নওগাঁ সদর এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে ১১৭ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ তাদেরকে আটক করা হয়েছে।তাদের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মোহনগঞ্জে শিশু পরশমণি নিহতের ঘটনায় মানববন্ধন

মোহনগঞ্জে শিশু পরশমণি নিহতের ঘটনায় মানববন্ধন


 

আজহারুল ইসলাম মোহনগঞ্জ (নেত্রকোনা): নেত্রকোনার মোহনগঞ্জের গ্রামীণ সড়কে ব্যাটারি চালিত অটো রিকশা চাপায় ১০ বছরের শিশু পরশমণি নিহতের বিচার দাবিতে মানব্বন্ধন করেছে এলাকাবাসী। 

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার সমাজ সহিলদেও ইউনিয়নের দূর্ঘটনারস্থল খানবাহাদুর বাজারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 
এতে এলাকার শিশু থেকে শুরু করে নানা বয়সী সহস্রাধিক মানুষ অংশগ্রহণ করে। 

এসময় বক্তারা ঘাতক চালককে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান। পাশাপাশি এমন গ্রামীণ সড়কে যান চলাচলে বেপরোয়া গাড়ি চলাচল বন্ধের দাবি জানান। 

তারা আরো জানান, ঘাতক চালক ও সমিতির নেতারা নিহত শিশুর পরিবারকে ২০ হাজার টাকা দিয়ে মীমাংসা করে ফেলতে চায়। যে কারণে হুমকি ধমকিও দেয় পরিবারটিকে। 

কিন্তু এই মীমাংসায় দুর্ঘটনা বাড়বে বিনে কমবে না দাবি করে তারা সুষ্ঠু বিচার চেয়ে করে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। 

মানববন্ধনে স্থানীয় ইউপি সদস্য আমিনুল হক,  আওয়ামী লীগ নেতা আবু শাহীন আকন্দ, যুবলীগ নেতা গোলাম পারভেজ, যুবলীগ নেতা সোহরাব  প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য গত বুধবার দুপুরে ওই এলাকার ইছা মিয়ার মেয়ে এবং সমাজ সহিলদেও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পরশমণি খান বাহাদুর বাজারে যাওয়ার পথে অটোরিকশার চাপায় ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।

যশোরে ৫ পুলিশ ও দুই র‌্যাব সদস্য সহ ৩১ জন নতুন আক্রান্ত

যশোরে ৫ পুলিশ ও দুই র‌্যাব সদস্য সহ ৩১ জন নতুন আক্রান্ত




সুমন হোসেন,  যশোর প্রতিনিধি। 
যশোরে শুক্রবার ৩১ জন নতুর শনাক্ত হয়েছেন। তারমধ্যে সদরের ২২ জন ও অভয় নগরের ৯ জন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন অফিসের মুখপাত্র ডাক্তার রেহনেওয়াজ। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪৬৬ জন ও সুস্থ্য হয়েছেন ১৫৫ জন। এদিকে যশোর সদরে আক্রান্তদের মধ্যে  ৫ জন পুলিশ সদস্য ও দুইজন র‌্যাব সদস্য রয়েছেন। ৫জন পুলিশ যশোর পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এছাড়া ঘোপ সেন্টাল রোডে একই পরিবারের চারজন। এর আগে ওই পরিবারে সওকত নামে একজন আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত দুজন মহিলা অপর দুইজন পুরুষ। টিবি ক্লিনিং এলাকার একই পরিবারের দুইজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।নলডাঙা  ১, বেজপাড়া  মেইন রোড ১, নীলগঞ্জ সাহাপাড়ায় ১, নাজির শংকরুির এলাকায় ১ জন, চাঁচড়া চেকপোস্টে একজন, সুজলপুর একজন, ঝুমঝুমপুরে ১ জন। এছাড়া রুপদিয়ায় একজন শনাক্ত হয়েছেন তিনি করোানা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরন করেন। আজ তার ফলাফল পজেটিভ এসেছে।

কুড়িগ্রামে বন্যা, ২৫ হাজার মানুষ পানিবন্দি"" মোঃইয়ামিন সরকার আকাশ

কুড়িগ্রামে বন্যা, ২৫ হাজার মানুষ পানিবন্দি"" মোঃইয়ামিন সরকার আকাশ




কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামে ধরলা-ব্রহ্মপুত্র বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। প্লাবিত হয়েছে দুই শতাধিক চর ও দ্বীপচরের নিম্নাঞ্চল। এসব এলাকায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছে প্রায় ২৫ হাজার মানুষ। নিমজ্জিত হয়েছে ফসল ও গ্রামীণ সড়ক।
জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম জানান, অবিরাম বৃষ্টি আর উজান থেকে আসা ঢলে শুক্রবার বেলা ১২টায় সেতু পয়েন্টে ধরলা নদী বিপৎসীমার আট সেন্টিমিটার এবং চিলমারী পয়েন্টে ব্রহ্মপুত্র চার সেন্টিমিটার ওপরদিয়ে প্রবাহিত হয়।

এছাড়া তিস্তা কাউনিয়া পয়েন্টে ৩৬ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে আর  ব্রহ্মপুত্র নুনখাওয়া পয়েন্টে বিপৎসীমার সাত সেন্টিমিটার চিচ দিয়ে প্রবাহিত হয় বলে তিনি জানান।

প্রকৌশলী বলেন, পানি যে হারে বাড়ছে তাতে সন্ধ্যার মধ্যে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে। কুড়িগ্রাম শহর রক্ষা বাঁধ সম্প্রতি সংস্কার করায় এবার ধরলার পানি শহরে আসতে পারবে না। তবে ব্রহ্মপুত্র, ধরলা, দুধকুমারসহ ১৬টি নদ-নদীর পানি বাড়তে থাকায় দুই শতাধিক চর ও দ্বীপচরের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এসব এলাকায় নিমজ্জিত হয়েছে ফসল ও গ্রামীণ সড়ক। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে প্রায় ২৫ হাজার মানুষ।

পানি বেড়ে যাওয়ায় নদীতীর ভাঙনের মাত্রা কিছুটা কমেছে জানিয়ে তিনি বলেন, এছাড়া কিছু ভাঙনকবলিত এলাকায় জরুরি ভিত্তিতে কাজ চলছে।

চরাঞ্চলের নিচু এলাকাগুলোয় বাড়িঘরে পানি ঢুকতে শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন জেলা কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক মোস্তাফিজার রহমান।

তিনি বলেন, সেসব এলাকায় তলিয়ে গেছে পাট, ভুট্টা, সবজি, তিল, আউশ ধান ও কাউনের ক্ষেত।

বন্যা মোকাবিলার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জেলা প্রশাসক মো. রেজাউল করিম জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় ভাঙনে পড়া পরিবারগুলোকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার কবলে জনপদ

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার কবলে জনপদ




মো:লাতিফুল আজম
কিশোরগঞ্জ  নীলফামারী প্রতিনিধি:


নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় নদী ভাঙ্গনে ১টি ব্রীজ, ২টি রাস্তা, ১টি এতিমখানা-মাদ্রাসা, ২টি মসজিদসহ প্রায় ৬ শতাধিক বাড়ি ঘর নদী গর্ভে বিলীন হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দেয়ায় বাড়ি ঘর নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার আতংকে অনেকের কাটছে ঘুমহীন রাত।


ক’দিনের টানা বষর্ণে হঠাৎ চারালকাটা ও ধাইজান নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। আজ শুক্রবার সরেজমিনে দেখা গেছে- কিশোরগঞ্জ সদর ইউনিয়নের কেশবা তেলীপাড়া গ্রামে নদী ভাঙ্গন বাড়ির কাছাকাছি এসে গেছে। যেকোন মুহূর্তে নদীগর্ভে যেতে পারে এখানকার ৫০টি পরিবারের ঘরবাড়ি। এ গ্রামে নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে আরও ১০০টি বাড়ি ঘর। পার্শ্ববর্তী গ্রাম জুগিপাড়ায় নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে ৬০টি ঘর বাড়ি।

একই ইউনিয়নের রুপালী কেশবা গ্রামে আশরাফুল উলুম মাদ্রাসা-এতিমখানাসহ ৪০টি ঘর বাড়ি নদী ভাঙ্গনের হুমকীতে পড়েছে । কেশবা ময়দানপাড়া গ্রামে ঈদগাহ্ মাঠসহ ১০০টি ঘর বাড়িও পড়েছে নদী ভাঙ্গনের কবলে। গদা বজলার মেম্বার বাড়ির সামনে বড়ভিটা-কিশোরগঞ্জ পাঁকা রাস্তা, সংলগ্ন মসজিদসহ ৪০টি ঘর বাড়ি নদী ভাঙ্গনে বিলীন হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। রাস্তাটি ভেঙ্গে গেলে কয়েক হাজার লোকের চলাচলা ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়বে। এমনকি বড়ভিটা ইউনিয়নের সাথে কিশোরগঞ্জ উপজেলার যোগাযোগের সহজ যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে যাওয়ারও আশংকা দেখা দিয়েছে।

এদিকে চাঁদখানা ইউনিয়নের সরঞ্জাবাড়ী গ্রামে সরঞ্জাবাড়ী পুরাতন জামে মসজিদের কাছাকাছি ভাঙ্গন আসায় মসজিদটিসহ ১০টি ঘর বাড়ি নদীগর্ভে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। পার্শ্ববর্তী অবস্থিত সরঞ্জাবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টিও হুমকির মুখে পড়বে। একই ইউনিয়নের দক্ষিণ চাঁদখানা চাড়ালকাটা নদীর উপরে সারোভাসা ব্রীজের গোড়াসহ রাস্তাটি ভাঙ্গণের হুমকির মুখে পড়েছে। যেকোন মুহূর্তে রাস্তাটি ভেঙ্গে যেতে পারে। নদীগর্ভে ব্রীজের গোড়াসহ রাস্তাটি নদীগর্ভে গেলে চাঁদখানা ইউনিয়নের কয়েক হাজার লোকের কেল্লাবাড়ী ও তারাগঞ্জের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ে যাবে। এছাড়া ওই গ্রামের ২০০ টি ঘর বাড়ি পড়েছেও ভাঙ্গনের হুমকীতে। এদিকে সরঞ্জাবাড়ী গ্রামে নদী ভাঙ্গণ মসজিদের কাছাকাছি আসায় এলাকাবাসী নিজেরাই বাঁশ দিয়ে পানির গতিপথ পরিবর্তন করায় ভাঙ্গণ সাময়িক বন্ধ করা গেছে। তারা জানান- সরঞ্জাবাড়ী পুরাতন জামে মসজিদ ভয়াবহ হুমকিতে রয়েছে। এখানে বাড়ি ঘরসহ একটি প্রাইমারী স্কুলের কাছাকাছি ভাঙ্গণ এসেছে।


কিশোরগঞ্জ সদর ইউপির তেলীপাড়া গ্রামের জেসমিন, মনজিলা, আঞ্জুয়ারা বেগম জানান- নদী ভাঙ্গণ ঘরের কাছাকাছি এসেছে। যে কোন সময় বাড়ি ঘর নদীতে ভেসে যেতে পারে। রাতে আমরা ঘুম পারতে পারছি না। কখন বাড়ি ঘর নদীগর্ভে যাবে সে আতংকে। তারা জরুরীভাবে বাঁধ নির্মাণ করে ঘর বাড়ি রক্ষার দাবী করেন।

রুপালী কেশবা গ্রামবাসী জানান- নদী ভাঙ্গন রোধে জরুরীভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে আশরাফুল উলুম মাদ্রাসাসহ এখানে ৪০টি বাড়ি ঘর নদীগর্ভে চলে যাবে। অন্যদিকে কেশবা ময়দানপাড়াবাসী জানান- নদী ভাঙ্গন যেভাবে শুরু হয়েছে এতে বাড়ি ঘর ও ঈদগাহ মাঠটি রক্ষা করা সম্ভব হবে না।


গদা গ্রামবাসী জানান- বজলার মেম্বারের বাড়ী সংলগ্ন নদী ভাঙ্গণে বড়ভিটা-কিশোরগঞ্জ রাস্তাটি হুমকীর মুখে পড়েছে। নদী ভাঙ্গনে রাস্তাটি ভেঙ্গে গেলে কয়েক হাজার লোকের যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়বে। এছাড়া মসজিদটি পড়েছে ভয়াবহ ভাঙ্গনের কবলে। রাস্তা, মসজিদ ও বাড়ী ঘর ভাঙ্গন রোধে জরুরীভাবে বাঁধ নিমার্ণের দাবী করেন এলাকাবাসী।


এলাকাবাসী আরও জানান- আগে নদী ভাঙ্গন এত ছিল না। ড্রেজার মেশিন দিয়ে নদী খনন করার ফলে এ ভানণ ভয়াবহ রুপ নিতে পারে। তারা আরও বলেন- ড্রেজার মেশিন দিয়ে নদী খনন করে বালু দু’ সাইডে রাখায় ক’দিনের বর্ষণে বালুগুলো নদীতে পড়ে যাচ্ছে এবং নদী ভাঙ্গনে বালুগুলো দিয়ে আবার নদী ভরাট হয়ে যাচ্ছে। এতে ভাঙ্গন আরও ভয়াবহ রুপ নিতে পারে।


চাঁদখানা ইউনিয়নের দক্ষিণ চাঁদখানা গ্রামবাসী জানান- নদী ভাঙ্গতে ভাঙ্গতে সকাল বেলা সারোভাসা ব্রীজের গোড়ার দিকে ভাঙ্গন এসেছে। ব্রীজের গোড়াসহ ব্রীজ সংযোগ রাস্তাটি নদী ভাঙ্গনের কবলে যে কোন সময় পড়তে পারে। এটি ভেঙ্গে পড়লে ব্রীজটি যেমন হুমকীর মুখে পড়বে অন্যদিকে চাঁদখানা ইউনিয়নের কয়েক হাজার লোকের কেল্লাবাড়ী-তারাগঞ্জের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়বে।


চাঁদখানা ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজার রহমান হাফি জানান- সারোভাসা ব্রীজের গোড়াসহ চাঁদখানা ইউনিয়েনের সাথে যোগাযোগের রাস্তাটি নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে। ভাঙ্গন ব্রীজের গোড়ার কাছাকাছি এসেছে। এছাড়া এ গ্রামের ২০০ টি ঘর বাড়ির নদী ভাঙ্গনে নদীগর্ভে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।


সৈয়দপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের এসডি মোফাখখারুল ইসলাম নদী ভাঙ্গনের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, নদী ভাঙ্গন এলাকাগুলো পরিদর্শন করে ভাঙ্গন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। দ্রুতই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান।
খবর পেয়ে নদী ভাঙ্গন এলাকাগুলো পরিদর্শন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ্ আবুল কালাম বারী পাইলট, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল কালাম আজাদ।


উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল কালাম আজাদ জানান- চাঁদখানা ইউনিয়নের সারোভাসা ব্রীজের গোড়াসহ রাস্তাটি, গদা রাস্তা, এতিমখানা ১টি, মসজিদ ২টি সহ ৬ শতাধিক বাড়ি ঘর ৭টি পয়েন্টে নদীগর্ভে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডকে অবহিত করা হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের এসডি মোফাখ্খারুল সাহেব আমাদের সাথে সব এলাকা দেখেছেন। তাদেরকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলা হয়েছে।


উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ্ আবুল কালাম আজাদ বলেন- নদী ভাঙ্গন থেকে রাস্তা, ব্রীজ, প্রতিষ্ঠান, মসজিদসহ ঝুঁকিপূর্ণ ঘর বাড়ী রোধে ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ নেয়ার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বলা হয়েছে। তারা জরুরীভিত্তিতে ভাঙ্গন রোধে কাজ শুরু করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

আশাশুনিতে নির্মান শ্রমিক ইউনিয়নের মেয়াদ উত্তীর্ন হলেও সভাপতি দাবী করে অবৈধভাবে আনুলিয়ায় কমিটি দিয়ে অফিস উদ্বোধন করার অভিযোগ

আশাশুনিতে নির্মান শ্রমিক ইউনিয়নের মেয়াদ উত্তীর্ন হলেও সভাপতি দাবী  করে অবৈধভাবে আনুলিয়ায় কমিটি দিয়ে অফিস উদ্বোধন করার অভিযোগ




 
আহসান  উল্লাহ  বাবলু  আশাশুনি( সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : আশাশুনিতে ইমারত নির্মান শ্রমিক ইউনিয়নের মেয়াদ উত্তীর্ন হলেও এখনো সভাপতি দাবী করে অবৈধভাবে আনুলিয়ায় ভুয়া কমিটি দিয়ে অফিস উদ্বোধন করার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বিকালে আনুলিয়া বাজারে ইউপি সদস্য আনন্দ কুমার মন্ডলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত দেখিয়ে শ্রমিক ইউনিয়নের আনুলিয়া ইউনিয়ন কমিটি গঠন ও অফিস উদ্বোধন করেছে দেখানো হয়েছে । অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি আশাশুনি উপজেলা  ইমারত ইউনিয়ন শ্রমিক ইউনিয়নের মেয়াদ উত্তীর্ন কমিটির সভাপতি আহসান হাবিব,সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ সোলায়মান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অবৈধভাবে ঘোষিত আনুলিয়া ইউনিয়ন ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের কমিটির সভাপতি আজিজুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক আব্দুর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহমত আলী। ইমারত ইউনিয়ন শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক  রফিকুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন আমি উক্ত অফিস উদ্বোধন  ও কমিটি গঠনের উপস্থিত ছিলাম না এপরও আমাকে উপস্থিত দেখানো হয়েছে। তাছাড়া  দীর্ঘদিন আশাশুনি উপজেলা ইমারত নির্মান শ্রমিক ইউনিয়নের মেয়াদ শেষ হয়। কিন্তু নতুন কোন উপজেলা ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের কমিটি গঠন কমিটি গঠন করা হয়নি। তাহলে কমিটির সাবেক সভাপতি আহসান হাবিব (রেজিঃ নং-২১৭০) এর নতুন সভাপতি দাবী করে কিভাবে আনুলিয়া ইউনিয়ন ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের কমিটি গঠন করে ও অফিস উদ্বোধন করল যা সম্পূর্ন অবৈধ। আহসান হাবিব সভাপতি পরিচয় দিয়ে অর্থ বানিজ্য করতে অবৈধভাবে  বিভিন্ন ইউনিয়নে কমিটি অনুমোদন দিচ্ছে। এ ব্যাপারে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জোর দাবী জানিয়ে প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

আশাশুনিতে আদর্শ সনাতন সেবা সংঘের বানভাসী অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

আশাশুনিতে আদর্শ সনাতন সেবা সংঘের    বানভাসী  অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ





আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি( সাতক্ষীরা)  প্রতিনিধিঃ 


আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা  প্রতিনিধি: আশাশুনিতে আদর্শ সনাতন সেবা সংঘের বানভাসী অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরন করেছে। গতকাল বিকালে  আদর্শ সনাতন সেবা সংঘ (ইচ্ছা) এর উদ্যোগে উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ ও  হিন্দু , বৈদ্য খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদসহ আশাশুনি সোনালী ব্যাংক লিমিটেড এবং উপজেলা দলিত পরিষদের সার্বিক সহযোগিতায় আশাশুনি বাজার কালি মন্দির চত্বরে বানভাসী অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরন উপলক্ষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা রাখেন প্রধান অতিথি উপজেলা পুজাউদযাপন পরিষদের সভাপতি সাবেক প্রধান শিক্ষক নীলকন্ঠ সোম।  হিন্দু , বৈদ্য খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি সাবেক অধ্যাপক সুবোধ চক্রবর্ত্তীর সভাপতিত্বে পুজা উদযাপন পরিষদের সেক্রেটারী সাবেক ইউপি সচিব গোষ্ঠ বিহারী সরকারের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন ও আলোচনা রাখেন বিশেষ অতিথি পুজা উদযাপন পরিষদের সেক্রেটারী রনজিৎ বৈদ্য, আশাশুনি  রিপোটার্স ক্লাবের সহসভাপতি এম এম সাহেব আলী,আদর্শ সনাতন সেবা সংঘ (ইচ্ছা)’র আশাশুনি শাখার  প্রধান সমন্বয়কারী মৃনাল কান্তি স্বর্ণকার, সনাতন ধর্ম জাগরনী সংঘের সভাপতি কর্ত্তিক সরকার, প্রভাষক বরুন মল্লিক, স্বেচ্ছা সেবকলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম, দলিত পরিষদের সেক্রেটারী নিমাই সরকার প্রমুখ ।

ঝিনাইদহ ৩ সংসদ সদস্য এ্যাডঃ শফিকুল আজম খাঁন চঞ্চল কে মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই

ঝিনাইদহ ৩ সংসদ সদস্য এ্যাডঃ শফিকুল আজম খাঁন চঞ্চল কে মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই
,  




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 



ঝিনাইদহ-৩আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জননেতা 
আলহাজ্ব এ্যাডঃশফিকুল আজম খাঁন চঞ্চল কে মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই কোটচাঁদপুর -মহেশপুরবাসী। 

বিশ্বব্যাপী আজ আতংকের নাম হচ্ছে করোনা ভাইরাস। মহামারী এই ভাইরাস রোধে লকডাউনে থাকা কৃষক, চায়ের দোকানদার, রিকশা- ভ্যানশ্রমিক ,মোটরশ্রমিক,স্কুল কলেজের শিক্ষক, শিক্ষিকা সহ সকল নিম্ম আয়ের মানুষ কর্মহীন হয়ে কষ্টে জীবন-যাপন করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মানবতার মা দেশনেত্রী,  শেখ হাসিনার নির্দেশে ঝিনাইদহ- ৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট শফিকুল আজম খাঁন চঞ্চল নিম্ম আয়ের মানুষের কষ্টের কথা ভেবে ধারাবাহিক ভাবে কোটচাঁদপুর – মহেশপুরের বিভিন্ন এলাকায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।
যিনি এই মহামারী করোনা ভাইরাসের  অপর নাম মৃত্যু, এই মৃত্যুকে ভয় না করে সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের পাশে সবসময় নিরলসভাবে খাদ্য সামগ্রী ও সচেতন মূলক নির্দেশনা এবং মানুষের পাশে থেকে প্রত্যেক এলাকায় যেয়ে  কাজ করে যাচ্ছেন। যেখানে সারা বাংলাদেশে দেখা যাচ্ছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ছাড়া কোন মন্ত্রী মানুষের পাশে কাজ করছেনা । 
কিন্তু এদিকে দেখা যাচ্ছে ঝিনাইদহ ৩ আসনের মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য এড্যাঃ  শফিকুল আজম খান চঞ্চল এর এলাকা কোটচাঁদপুর-মহেশপুরে থেমে নেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মূলক কোন কাজ।
সেবাই যার ধর্ম, যার ভিতরে বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও স্বপ্ন বিরাজমান এবং দুই বার নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য,  তাকে কোটচাঁদপুর ও মহেশপুর এলাকাবাসী মন্ত্রী হিসাবে দেখতে চাই।  

পরিশেষে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে কোটচাঁদপুর -মহেশপুরবাসীর একটাই দাবি, 
ঝিনাইদাহ-৩ আসনের মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য জননেতা এ্যাডঃ শফিকুল আজম খান চঞ্চল কে মন্ত্রীত্ব আসনে বসানো হোক।

সেভ দ্য টুমরো আয়োজনে সাতক্ষীরায় বৃক্ষ রোপন কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন

সেভ দ্য টুমরো আয়োজনে সাতক্ষীরায় বৃক্ষ রোপন কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন





আজহারুল ইসলাম সাদী, জেলা প্রতিনিধিঃ

চলো বন্ধু বদলে যাই, মানবতার বিশ্ব চাই। এই শ্লোগান কে সামনে রেখে বাংলাদেশ মানব সেবা সংগঠন সেভ দ্য টুমরো সাতক্ষীরা জেলা শাখার আয়োজনে বিনেরপোতা বিসিক এলাকা বাইপাস সড়কে বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি-২০২০ উদ্বোধন করা হয়েছে।
উক্ত বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি-২০২০ উদ্বোধন উপলক্ষে আজ (২৬ জুন) রোজ শুক্রবার বিকাল ৫ ঘটিকায় সেভ দ্য টুমরো সাতক্ষীরা শাখার সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে
ও পরিচালনায় আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তালা উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ শাখার আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন ও পাটকেলঘাটা থানার ২ নং নগরঘাটা ইউনিয়নের সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সরোয়ার হোসেন।
সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তানিয়া সুলতানা, আরিফ হোসেন,আসিফ হোসেন, নাসিরউদ্দীন, ইলিয়াস হোসেন, শেখ ইকরামুল ইসলাম, মনিরুল ইসলাম রাকিবুজ্জামান,শরিফ ওবায়দুল্লাহ ও কেন্দ্রীয় তত্বাবধায়ক রত্না পারভীন প্রমুখ।

আশাশুনিতে আবারো ইউপি সদস্য নীলকণ্ঠ গাইন কর্তৃক ভুয়া জেলে সেজে কার্ড করার অভিযোগ

আশাশুনিতে আবারো ইউপি সদস্য নীলকণ্ঠ গাইন কর্তৃক ভুয়া জেলে সেজে কার্ড করার অভিযোগ






আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি( সাতক্ষীরা)  প্রতিনিধিঃ আশাশুনিতে বহুল আলোচিত দুর্নীতির আখড়া ভূমিদস্যু ইউপি সদস্য হেতাইলবুনিয়া গ্রামের মৃত নিরোধ গাইনের পুত্র নীলকন্ঠ গাইন কর্তৃক ভুয়া জেলে সেজে জলমহাল ইজারা নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। (২৫ই জুন) বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর এক লিখিত অভিযোগ সূত্রে ও এলাকাবাসীর তথ্য অনুযায়ী সে এবং তার মৎস্যজীবী সমিতির অন্যান্য সদস্যগণ সনাতন সম্প্রদায়ের লোকজন হইতেছেন কিন্তু অতি লোভে নিজের ধর্মকে ভুলে যেয়ে ভুয়া জেলে সেজে মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি রেজিস্ট্রেশন করেন। যেটা সম্পূর্ণরূপে মৎস্য আইন বিরোধী। সরেজমিনে ওই এলাকায় উপস্থিত হয়ে দেখা গেছে ভূমিদস্যু মামলাবাজ ও তথ্য গোপন কারী ইউপি সদস্য নীলকণ্ঠ গাইন ধাড়িয়াখালি ও হেতাইলবুনিয়া খাল জলমাহলটি শুকৌশলে শ্রেণী পরিবর্তন করে প্রশাসনকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ছাদসহ পাকা বাড়ি নির্মাণ করে তিনি নিজেই বসবাস করে যাচ্ছেন। শুধু তাই নয় সরকারি নিয়ম অনুযায়ী জলমহাল কারো নিকট হস্তান্তর করা যাবে না কিন্তু ইউপি সদস্য নীলকন্ঠ গাইন সুকৌশলে তার অনুসারীদের অর্থের বিনিময় উক্ত সরকারি খালের পজিশন বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।যাহা সরকারি জলমহল ইজারা নীতিমালার পরিপন্থী। এই ইউপি সদস্য আবারো মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দিয়ে জলমহাল ইজারা নেয়ার পায়তারা চালাচ্ছে। এব্যাপারে বড়দল ইউনিয়ন (ভূমি) সহকারী কর্মকর্তা রনজিত কুমার মন্ডলের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, বিষয়টি আমি জানার পর আইন অনুযায়ী ইউপি সদস্য নীলকন্ঠ গাইনসহ সকলকে নোটিশ প্রদান সহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি। উল্লেখ্য গত ০৩/০৫/২০২০ তারিখে তার বিরুদ্ধে পল্লী বিদ্যুতের লাইন নির্মাণের কথা বলে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করার বিষয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নিকট লিখিত অভিযোগ করেন। উক্ত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এলাকায় সরেজমিনে তদন্ত কার্যক্রম হয়। তদন্তে টাকা আত্মসাতের বিষয়টি প্রমাণিত হয় র্মমে তার প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন। এবং পেন্ডিং মামলার আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন। এছাড়াও ভূমিদস্যু ইউপি  সদস্য নীলকন্ঠ গাইন এর বিরুদ্ধে এলাকায় একাধিক দাঙ্গা, হাঙ্গামা, মামলা মোকদ্দমা সহ বিভিন্ন প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। প্রশাসনকে মিথ্যা তথ্য ও ফাঁকি দিয়ে যাহাতে ধাড়িয়াখালি ও হেতাইলবুনিয়া জলমহাল ইজারা নিতে না পারে তার জন্য প্রশাসনের নিকট তদন্তপূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী

কুমিল্লার হোমনায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালন

কুমিল্লার হোমনায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের  বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালন




শাহ আলম জাহাঙ্গীর
ব্যুরো চিফ, কুমিল্লা


কুমিল্লার হোমনা উপজেলায় "গাছ লাগান পরিবেশ বাচাঁন"এই স্লোগান নিয়ে মুক্ত জীবন রক্তদান সংগঠন, শ্রীনগর আর্দশ যুব কল্যান সংগঠন ও গ্রীন ভয়েজ এর যৌথ উদ্যোগে বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি-২০২০ পালিত হয়।

আজ শুক্রবার (২৬জুন)বিকেল ৪ টায় রামকৃষ্ণপুর বিশ্বাবিদ্যালয় কলেজ মাঠে এই গাছ লাগানোর কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন রামকৃষ্ণপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ  মো. শফিকুল ইসলাম, দৈনিক দেশকাল হোমনা প্রতিনিধি আল আমিন শাহেদ,    মুক্ত জীবন স্বেচ্ছায় রক্ত দান সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক  রুবেল রানা, মুক্ত জীবন স্বেচ্ছায় রক্ত দান সংগঠনের সভাপতি আবু সাঈদ,   মুক্ত জীবন স্বেচ্ছায় রক্ত দান সংগঠনেরর সাধারণ সম্পাদক তৌকির আহমেদ ও শ্রীনগর আর্দশ যুব কল্যান সংগঠন ও সকল সদস্যবৃন্দ।

এই কার্যক্রমের আওতায় রামকৃষ্ণপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে ফলজ, ঔষধি গাছ ও সৌন্দর্য বর্ধক গাছ লাগিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করা হয়। পরে শ্রীনগর নতুন রাস্তায় গাছ লাগানো হয় ও পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন স্থানে গাছ লাগনোর কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

কুমিল্লার গৌরীপুরে দেশ হসপিটালের ল্যাব টেকনিশিয়ানের জবাই করা লাশ উদ্ধার

কুমিল্লার গৌরীপুরে দেশ  হসপিটালের  ল্যাব টেকনিশিয়ানের জবাই করা লাশ উদ্ধার




শাহ আলম জাহাঙ্গীর
ব্যুরো চিফ, কুমিল্লা

কুমিল্লার দাউদকান্দির গৌরীপুরে বেসরকারি একটি হাসপাতালের  ল্যাব টেকনিশিয়ান এমদাদুল হক মিঠুর  (২৬) জবাই করা লাশ উদ্ধার করেছে মডেল থানা পুলিশ ।
আজ  ২৬ জুন শুক্রবার সকালে উপজেলার গৌরীপুর দেশ হসপিটালের কয়েক’শ গজ পেছনে ডোবা থেকে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। গৌরীপুর দেশ হসপিটালের ল্যাব টেকনিশিয়ান নিহত এমদাদুল হক মিঠু (২৬) মুরাদনগর উপজেলার হাড়পাকনা গ্রামের আবুল হোসেন সরকারের ছেলে । সে দেশ হসপিটালের ল্যাব টেকনিশিয়ান পদে চাকরি করতেন এবং হাসপিটালের আবাসিক স্টাফদের কক্ষে থাকতেন। দেশ হসপিটালের পরিচালক কুতুব উদ্দিন জানান, মিঠু হাসপাতালের তিনতলায় একটি রুমে থাকতো। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ অনুযায়ী বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় হাসপাতাল থেকে বের হয়ে যায় । রাতে আর ফিরে আসেনি। শুক্রবার সকালে তার  লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। কুমিল্লার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (দাউদকান্দি সার্কেল) আবু সালাম চৌধুরী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে পরিকল্পিতভাবে তাকে জবাই করে হত্যা করা হয় । লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ কাজ শুরু করেছে।

হবিগঞ্জ জেলায় করোনায় একদিনে ৩ জনের মৃত্যু

হবিগঞ্জ জেলায় করোনায় একদিনে ৩ জনের মৃত্যু


,

লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

হবিগঞ্জ জেলায় একদিনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিনজনের মৃত্যু সংবাদ পেলেন জেলাবাসী। এর মধ্যে দুইজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেও ১ জন মারা গেছেন শুধুমাত্র উপসর্গ নিয়ে। স্বাস্থ্যবিভাগ তার নমুনা পরিক্ষার জন্য সংগ্রহ করেছে। একদিনে ৩ জনের মৃত্যুর সংবাদে সচেতন মহলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লেও বাড়েনি শতর্কতা। শারীরিক দূরত্ব বা স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই চলাচল করছেন সাধারণ মানুষ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মনি রানী রায় নামে হবিগঞ্জের এক গৃহবধু সিলেটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। যদিও তার মৃত্যুর সংখ্যাটি সিলেটের তালিকায় থাকবে বলে জানা গেছে। তিনি হবিগঞ্জ পৌরসভার উমেদনগর মধ্যহাঠির বিশিষ্ট ব্যবসায়ি উজ্জ্বল রায়ের স্ত্রী। অন্যদিকে আজমিরীগঞ্জের এক যুবক করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার পর বৃহস্পতিবার তার করোনা পজেটিভ আসে। মারা যাওয়া নিতেন্দ্র দাশ (৫৫) উপজেলার জলসুখা গ্রামের বাসিন্দা। ২২ জুন তিনি নমুনা দেয়ার পর বাড়িতেই মারা যান।

এছাড়া, জ্বর ও শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন করোনা উপসর্গ নিয়ে হবিগঞ্জ জেলা কারাগারে এক আসামির মৃত্যু হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২৫-জুন) সকালে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত আসামির নাম শাহীন (৪০)। তিনি চুনারুঘাট উপজেলার বড়আব্দা গ্রামের সালেহ আহমদের ছেলে। মাদক মামলার কারাগারে ছিলেন তিনি।

হবিগঞ্জ কারাগারের জেলার মোঃ জয়নাল আবেদীন ভূঞা জানান, শাহীন একটি মাদক মামলায় গত ১২ জুন কারাগারে আসেন। মামলাটি বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছে। তার আসামি নম্বর ২৪৭০/২০। তিনি আগে থেকেই শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। বুধবার (২৪ জুন) দিবাগত রাতে তার শরীরে জ্বর আসে। ফলে বৃহস্পতিবার সকালে তাকে সদর আধুনিক হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে।

উল্লেখ্য- এ পর্যন্ত হবিগঞ্জে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৬ জনের মৃত্যুর সংবাদ নিশ্চিত হওয়া গেছে। জেলা মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫২২ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ছেন ১৮২ জন।

মাগুরায় পুলিশের তৎপরতায় অজ্ঞান পার্টির কবল থেকে যুবক উদ্ধার,

মাগুরায় পুলিশের তৎপরতায় অজ্ঞান পার্টির কবল থেকে যুবক উদ্ধার,




মোঃকুতুবুল আলম 
মহম্মদপুর(মাগুরা)

মাগুরা সদর থানা পুলিশের তৎপরতায় উদ্ধার হলো অজ্ঞান পার্টির দ্বারা প্রতারণার শিকার সদরের সুজন মোল্যা (২৫)। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলার শালিখা উপজেলার আড়পাড়া গ্রামে অজ্ঞান অবস্থায় একটি ঘরের মধ্যে পড়ে থাকা অবস্থায় উদ্ধার হয় সদরের জগদল গ্রামের শহিদ মোল্যার ছেলে সুজন।মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন জানান – গতকাল বুধবার দুপুরে অটোরিক্সাসহ ভাড়া নেয় এক দুর্বৃত্ত। সেখান থেকে তাকে কৌশলে মাদক জাতীয় কিছু খাইয়ে অজ্ঞান করে আড়পাড়া বাজারে নিয়ে গিয়ে একটি বাড়িতে আটকে রেখে তার অটোরিক্সা ও মোবাইল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে রাতে সে বাড়িতে না আসলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে সদর থানায় একটি ডায়েরী করা হয়। এ ডায়রীর ভিত্তিতে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে স্থানীয়দের সহায়তায় আজ সন্ধ্যায় পুলিশ শালিখার আড়পাড়া বাজারের মাত্র ১দিন আগে দুর্বৃত্তদের ভাড়া নেয়া একটি ঘর থেকে অচেতন অবস্থায় সুজনকে উদ্ধার করে। পরে তাকে মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সুজনের ব্যবহৃত অটোরিক্সা ও মোবাইল ফোন খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।এদিকে অসহায় সুজনের চিকিৎসায় তার পাশে দাঁড়িয়েছে মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখরের নির্দেশে গড়ে ওঠা জেলা যুবলীগের হটলাইন টিম। রাতে হাসপাতালে গিয়ে ওই যুবককে পথ্য ও ওষুধ সরবরাহ করে হটলাইন টিমের দলনেতা জেলা যুবলীগের আহবায়ক ফজলুর রহমান তারা।

শৈলকুপায় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ২আহত ২

শৈলকুপায় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ২আহত ২



সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি 

ঝিনাইদহ কুষ্টিয়া হাইওয়ে রোডের দুধসর হাইস্কুলের সামনে ট্রাক ড্রাইভার হান্নান (২৫) এবং অপরিচিত একজন নিহত হয়েছে। ঝিনাইদহ থেকে কুষ্টিয়া খালি ট্রাক নিয়ে যায়তেছিলো। গাড়িটি অতিরিক্ত গতির কারণে  নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে এই দূর্ঘটনা ঘটে। আহত ২ জন কে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

দেশে নতুন করোনায় আক্রান্ত -৩৮৬৮

দেশে নতুন করোনায় আক্রান্ত -৩৮৬৮





নিউজ ডেস্কঃ
আজ ২৬ শে জুন দেশে করোনায় আরও ৪০ জনের মৃত্যু, মোট মৃত্যু ১৬৬১।আজ মোট
১৮৪৯৮ নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে যার মধ্যে ৩৮৬৮ জনের করোনা শনাক্ত। যা
নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২০.৯১ শতাংশ। এ নিয়ে সারা দেশে এ পর্যন্ত ১,৩০৪৭৪ জনের করোনা শনাক্ত।অপর দিকে গত
২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৬৩৮ জন, এপর্যন্ত  মোট সুস্থ ৫৩১৩৩ জন
*******
সামাজিক দুরত্ব মেনে চলুন, নিয়মিত মাস্ক ব্যবহার করুন ---
প্রচারে দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজ


৮ম ও ১০ ম শ্রেণির পাঠদান এখন যশোর সিটি ক্যাবলের মাধ্যমে সম্প্রচার

৮ম ও ১০ ম শ্রেণির পাঠদান এখন যশোর সিটি ক্যাবলের মাধ্যমে সম্প্রচার




নিউজ ডেস্কঃ দেশের করোনা কালিন সময়ে দেশের কোমল মতি ছাত্র ছাত্রীদের লেখাপড়ার ব্যাঘাত এড়াতে যশোর জেলা শিক্ষা অফিস যশোর সিটি ক্যাবলের মাধ্যমে ৮ম ও ১০ শ্রেণির পাঠদান সরাসরি সম্প্রচারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।     

শৈলকুপায় খালে বাধ দিয়ে মাছ শিকার, নষ্ট হচ্ছে হাজার হাজার একর জমির ফসল

শৈলকুপায় খালে বাধ দিয়ে মাছ শিকার, নষ্ট হচ্ছে হাজার হাজার একর জমির ফসল







সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা উপজেলা প্রতিনিধি 

"বাধতো নয় যেনো কৃষক হত্যার অস্ত্র"। কতিপয় মৎস শিকারির স্বার্থসিদ্ধির জন্যে হাজারো কৃষকের ফসল নষ্ট। ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপার ‌উপজেলার ১৩নং উমেদপুর ইউনিয়নের বারইপাড়া গ্রাম থেকে উৎপত্তি খাল নং D-3 তে অন্তত ১৫ টি বেড়িবাঁধ এর ফলে বেশ কয়েকটি গ্রামের মাঠ প্লাবিত আবার কোথাও পানির সংকট এর সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলশ্রুতিতে ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাম গুলো হল বারইপাড়া,কদমতলা,বৃষ্ণপুর, ব্রাহিমপুর, লক্ষনদিয়া, কৃষ্ণপুর, বাহাদুরপুর, পার্বতীপুর, ষষ্টীপুর, লক্ষীপুর। আমি সরজমিনে গিয়ে দেখতে পায় কিছু মৎস্য শিকারী বেড়িবাঁধ এর মাধ্যমে মাছ শিকার করার উদ্দেশ্যে এ বাধ গুলো দিয়েছে। এতে এ এলাকার অধিকাংশ আবাদি ফসল পাট, তিল,ধান নষ্ট হয়ে গেছে। এখন এলাকার  কৃষকের আমন ধানের মৌসুম সামনে রেখে কোথাও জলাবদ্ধতা আবার পানিশূন্যতার স্বীকার হচ্ছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ব্রাহিমপুর গ্রামের  কৃষক মোঃ আদর হোসেন (৪০) বলেন, এ পরিস্থিতি এলাকার মানুষের অসচেতনতার ফল। তা না হলে কয়-একজন মাছ শিকারীর জন্য প্রায় ২৫০০০, থেকে ২৭০০০, হাজার কৃষকের ফসলের এ অবস্থা হত না। আমরা অতি দ্রুত এর থেকে পরিত্রাণ পেতে চাই।অনান্য গ্রামের কৃষকদের দাবি, আমরা এ বাধ ভেঙ্গে দিয়ে আসলেও রাতারাতি তা আবার গড়ে ওঠে,এ নিয়ে সামাজিক, দলীয় কোন্দলের ও সৃষ্টি হয় ।তাই ক্ষতিগ্রস্থ গ্রামের কৃষকেরা এ ব্যপারে জেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে।

মোংলায় কেসিসি মেয়র খালেক করোনা মোকাবেলায় যে যেখানে আছেন সেখানেই কোরবানীর ঈদ করুন

মোংলায় কেসিসি মেয়র খালেক  করোনা মোকাবেলায় যে যেখানে আছেন সেখানেই   কোরবানীর ঈদ করুন




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা   
করোনা মোকাবেলায় যে যেখানে আছেন সেখানেই কোরবানির ঈদ উদযাপন করুন। আত্মীয়-স্বজনদের বলে দিতে হবে ঈদে ঘোরাঘুরি করা যাবে না। নিজেরা ভালো থাকতে হলে আড্ডা দেয়ার দরকার নেই। প্রয়োজনীয় বাজার করে ঘরেই অবস্থান করুন। রোজার ঈদ বাড়ীতে করতে আসায় করোনা সংক্রম বেড়েছে। সচেতনতা ছাড়া করোনা সংক্রমণ রোধ করা যাবে না। ২৬ জুন শুক্রবার সকালে মোংলা উপজেলা পরিষদ চত্বরে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থার খাদ্য সহায়তা এবং নগদ অর্থ বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি কপোর্রেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক একা বলেন।

শুক্রবার সকাল ১০টায় শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত নগদ অর্থসহ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের চেক ও ডিও হস্তান্তর অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাহাত মান্নান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন, সহকারি কমিশনার ( ভূমি ) নয়নকুমার রাজবংশী, অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জীবিতেষ বিশ্বাস এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ নাহিদুজ্জামান। এসময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপাই ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম, মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইস্রাফিল হোসেন, সুন্দরবন ইউপি চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন, পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আল মামুন প্রমূখ। খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক মোংলা পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন কতিপয় দূর্বৃত্ত শ্রমিক নেতা মোংলা বন্দরকে অস্থিতিশীল করতে চায়। তাদের ব্যাপারে আইন-শৃংখলা বাহিনীকে কঠোর এবং সতর্ক থাকতে হবে। উল্ল্যেখ্য খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের মাধ্যমে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রান মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ১০০ বান্ডিল ঢেউটিন, নগদ ৩ লাখ টাকা, ১২শো ৬০ পরিবারের মাঝে শিশু খাদ্য বিতরণ করেন। এছাড়া টিআর-কাবিখার মাধ্যমে রাস্তঘাট উন্নয়নকল্পে  ৮৭ লাখ টাকা এবং ১৯৭ মেট্রিক টন খাদ্যশস্য ছাড়া করা হয়। অন্যদিকে সিটি মেয়র ঐচ্ছিক তহবিলের ২০জনের প্রত্যেককে ৫হাজার টাকা এবং সমাজসেবা অফিসের ৫০জনকে বয়স্ক ভাতা প্রদান করেন।

চিকিৎসক,নার্স,পুলিশসহ দিনাজপুরে করোনায় নতুন আরো ১৯ জন আক্রান্ত

চিকিৎসক,নার্স,পুলিশসহ দিনাজপুরে করোনায় নতুন আরো ১৯ জন আক্রান্ত





দিনাজপুর প্রতিনিধি :সারাদেশের সাথে তাল মিলিয়ে দিনাজপুরেও করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। বৃহস্পতিবার জেলায় চিকিৎসক,নার্স ও পুলিশ সদস্যসহ দিনাজপুরে নতুন আরো ১৯ জনের করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। 
বৃহস্পতিবারের স্বাস্থ্য বিভাগের রির্পোট অনুযায়ী জানা গেছে ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আরো ১৯ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো  ৫৫৬ জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একজন নারী চিকিৎসক, জেনারেল হাসপাতালের একজন নার্স ও একজন পুলিশ সদস্য রয়েছেন। একই সময়ে নতুন ১৪ জনসহ এ পর্যন্ত ২৮৭ জন সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেছেন এবং জেলায় এ পর্যন্ত মৃত্যুবরন করেছে ১০ জনের।
দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুল কুদ্দুছ জানান, বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নতুন আরো ১৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগির সংখ্যা দাড়ালো ৫৫৬ জনে। 
নতুন আক্রান্তদের মধ্যে দিনাজপুর সদর উপজেলায় ৭ জন, কাহারোলে ৩ জন, বিরামপুরে ৬ জন, পার্বতীপুরে একজন, বিরলে একজন ও নবাবগঞ্জ উপজেলায় একজন। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় নতুন আরো ১৪ জনসহ এ পর্যন্ত ২৮৭ সুস্থ হয়েছেন সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেছেন। সুস্থদেরে মধ্যে সদর ১০ জন, বিরলে একজন, বীরগঞ্জে দুইজন ও ফুলবাড়ী উপজেলায় একজন। আর এ পর্যন্ত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। 
সিভিল সার্জন জানান, আক্রান্ত ৫৫৬ জনের মধ্যে ৩৯৫ জন পুরুষ, নারী ১৩০ জন ও শিশু ৩০ জন। আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলায় ১৮৪ জন (মৃত ২জনসহ), কাহারোলে ২৩ জন (মৃত দুইজনসহ), বিরলে ৪২ জন, বোচাগঞ্জে ১৬ জন (মৃত একজনসহ), পার্বতীপুরে ৪০ জন (একজন মৃতসহ), ফুলবাড়ীতে ১৮ জন, নবাবগঞ্জে ৩০ জন, হাকিমপুরে ৬ জন, খানসামায় ২৯ জন, বিরামপুরে ৫৯ জন, ঘোড়াঘাটে ৩৯ জন (মৃত একজনসহ), চিরিরবন্দরে ৪৬ জন (মৃত ৩ জনসহ) ও বীরগঞ্জ উপজেলায় ২১ জন।
অপরদিকে সুস্থ ২৯৩ জনের মধ্যে দিনাজপুর সদর উপজেলায় ৭৫ জন, বিরলে ৩৪ জন, বোচাগঞ্জে ৯ জন, কাহারোলে ১১ জন, বীরগঞ্জে ১৬ জন, খানসামায় ৭ জন, চিরিরবন্দরে ১২ জন, পার্বতীপুরে ২৯ জন, ফুলকাড়ীতে ১৪ জন, বিরামপুরে ২৮ জন, নবাবগঞ্জে ২১ জন, হাকিমপুরে ৪ জন ও ঘোড়াঘাটে ২৭ জন। 
সিভিল সার্জন জানান, বৃহস্পতিবার ১০৬টি নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ১৯টি নমুনার ফলাফল পজিটিভ, ৪টি নমুনার ফলোআপ ফলাফল পজিটিভ ও বাকী ৪৭টি নমুনার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। 
আর গত ২৪ ঘন্টায় ৪৭ টিসহ এ পর্যন্ত ৬ হাজার ৪৬৯টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আর গত ২৪ ঘন্টায় ১০৬টিসহ এ পর্যর্ন্ত ৫ হাজার ৯৫৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় ১৪১ জনসহ এ পর্যন্ত ১২ হাজার ২৬৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। 
এছাড়া হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ২২৮ জন, প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে রয়েছেন ১৬ জন, হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ১৪ জন এবং ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান সিভিল সার্জন ডা: মো. আব্দুল কুদ্দুস।

করোনার হট স্পষ্ট এখন শৈলকুপা নতুন আক্রান্ত ২ জন

করোনার হট স্পষ্ট এখন শৈলকুপা নতুন আক্রান্ত ২ জন



সম্রট হোসেন, শৈলকুপা উপজেলা প্রতিনিধি( ঝিনাইদহ) 

২৬/০৬/২০২০ রোজ শুক্রবার ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলায় আরাও ২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। একজনে বাড়ি উপজেলার  বেড়বাড়ি গ্রামে অপর জনের বাড়ি চণ্ডিপুর গ্রামে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে মোট প্রায় ১৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ৩৮ জন। মোট মৃত্যু ১ জন। 

মোংলায় প্রবাসীদের সহযোগিতায় ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থদের খাদ্য সহায়তা

মোংলায় প্রবাসীদের সহযোগিতায় ঘূর্ণিঝড় আম্পানে  ক্ষতিগ্রস্থদের খাদ্য সহায়তা





মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা   
 জার্মান প্রবাসী সাঈদ শাকিল এবং থকামরান এন্ড নেটওয়ার্কথ এর আর্থিক সহযোগিতায় পশুর রিভার ওয়াটারকিপারের ব্যবস্থাপনায় ২৬ জুন শুক্রবার সকালে মোংলার লেবার জেটি চত্বরে দক্ষিণ কাইনমারি ও কানাইনগর গ্রামের ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থদের খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। 

শুক্রবার সকাল ৮টায় শারিরীক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে খাদ্য সহায়তা প্রদানকালে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পশুর রিভার ওয়াটারকিপার সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণাঞ্চল সেবা সংঘথর সভাপতি এস এম এ মামুন, বাপা নেতা নাজমুল হক, জেলে সমিতির সভাপতি আব্দুর রশিদ, পশুর রিভার ওয়াটারকিপার ভলান্টিয়ার কমলা সরকার, মাহারুফ বিল্লাহ প্রমূখ। এসময় বক্তারা ঘুর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ মোংলাবাসীর পাশে থাকার জন্য জার্মান প্রবাসী সাঈদ শাকিল এবং থকামরান এন্ড নেটওয়ার্কথ এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। উল্ল্যেখ্য ঘূর্ণিজড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ অর্ধশতাধিক পরিবারের মাঝে জার্মান প্রবাসী সাঈদ শাকিল এবং থকামরান এন্ড নেটওয়ার্কথ এর পক্ষ থেকে চাল, ডাল, তেল, আলু, পেয়াজ, লবন, স্যালাইনসহ প্রভৃতি খাদ্য সাহায়তা প্রদান করা হয়।

নওগাঁয় বৈদ্যুতিক সার্কিট থেকে আগুন লেগে ৪ বসতঘড় ভস্মীভূত,লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি

নওগাঁয় বৈদ্যুতিক সার্কিট থেকে আগুন লেগে ৪ বসতঘড় ভস্মীভূত,লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি


 


 মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর আত্রাইয়ে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুন লেগে ৪টি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। বৃহস্প্রতিবার সন্ধ্যা ৬.৩০  টার সময় উপজেলার আহসানগঞ্জ ইউনিয়নের সিংসাড়া পূর্বপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
ফায়ার সার্ভিস ও পরিবার সুত্রে জানা যায়,পাশের বাড়ীতে বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। বাড়ীর  লোকজন বিয়ের অনুষ্ঠানে ছিল। হঠাৎ আগুনের শিখা ও ধোঁয়া দেখতে পেয়ে হৈচৈ শুরু করলে প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসে। পরে ফায়ার সার্ভিস খবর পেয়ে দ্রুত সেখানে গিয়ে গ্রামের লোকদের সহায়তায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। ততোক্ষণে ঐ গ্রামের মৃত রহমতুল্ল্যার ছেলে মো. আমিনুল সরদার (৩৮) এর  টিনের বাড়ীর ৪টি ঘরের সমস্ত মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে আনুমানিক দেড় লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানায় তারা।

আত্রাই ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার নিতাই চন্দ্র ঘোষ বলেন,সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনি। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে  বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট হতে আগুনের সূত্রপাত হয়।

সিরাজগঞ্জে শনিবার থেকে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে ডিজিটাল মেলা

সিরাজগঞ্জে শনিবার থেকে  অনলাইন প্ল্যাটফর্মে ডিজিটাল মেলা




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ 
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন
সিরাজগঞ্জের সুযোগ্য  জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ ২৭ জুন থেকে ২৯ জুন পর্যন্ত সিরাজগঞ্জসহ সারা দেশে  প্রথমবারের মাতো অনলাইন প্ল্যাটফর্মে ডিজিটাল মেলা-২০২০ অনুষ্ঠিত হবে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর ও এটুআই-এর সহযোগিতায় বর্তমান করোনা (কোভিড-১৯) সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় ৬৪টি জেলার ডিজিটাল কার্যক্রমকে জাতীয় তথ্য বাতায়নের মাধ্যমে নাগরিকদের কাছে উপস্থাপনের লক্ষ্যে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
গত ২৫ জুন  বৃহস্পতিবার  করোনা সংক্রামন পরিস্থিতিতে বিবেচনায় এনে বিভিন্ন দিক নিয়ে এক প্রেস কনফান্সের আয়োজন করা হয়। জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের শহীদ শামসুদ্দিন  সম্মেলন কক্ষে এই প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ ।
তিনি বলেন, একটি উন্নত দেশ, সমৃদ্ধ ডিজিটাল সমাজ, একটি ডিজিটাল যুগের জনগোষ্ঠী, রূপান্তরিত উৎপাদন ব্যবস্থা, নতুন জ্ঞানভিত্তিক অর্থনীতি, সব মিলিয়ে একটি জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গঠনের স্বপ্নই দেখিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ডিজিটাল বাংলাদেশ বস্তুত জ্ঞানভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার প্রথম সোপান। একাত্তরে মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পরবর্তী প্রজন্মের জন্য সমৃদ্ধ ও উন্নত জীবন প্রতিষ্ঠা করার মাধ্যমে যে স্বপ্নের সোনার বাংলা’ গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন, সে স্বপ্ন আজ পূরণের অন্যতম মাধ্যম হলো ডিজিটাল বাংলাদেশ।
জেলা প্রশাসক আরো বলেন, উন্নয়নমূলক উদ্যোগের মাধ্যমে জনগণের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে সরকার। আর সেই মহৎ কর্মযজ্ঞের অংশীদার সিরাজগঞ্জ  জেলা প্রশাসনও। জেলা প্রশাসন সিরাজগঞ্জ  ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে সক্রিয় অংশগ্রহণ করছে এবং মাঠ পর্যায়ের সকল স্তরে ডিজিটাল কার্যক্রম সম্প্রসারণে সমন্বয় সাধনের পাশাপাশি বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সরকারের সেই উদ্যোগসমূহ ডিজিটাল মেলার মাধ্যমে অনলাইনে জনগণের সামনে তুলে ধরা হবে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মোঃ  ফিরোজ মাহমুদ ,অতিরিক্ত জেলা  প্রশাসক  শিক্ষা ও আইসিটি 
 এ,বি,এম রওশন কবীর,
,সহকারী  কমিশন  ও এক্সিকিউটিভ  ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাসুদুর  রহমান , সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবে  সাধারণ সম্পাদক  ফেরদৌস রবিন    সহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্টনিক মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ ।

সিঙ্গাপুরে নিয়মভঙ্গ করায় স্থায়ীভাবে কাজের অনুমতি বাতিল করা হলো

সিঙ্গাপুরে নিয়মভঙ্গ করায় স্থায়ীভাবে কাজের অনুমতি বাতিল করা হলো




মোঃ নাঈম শেখ সিঙ্গাপুর প্রতিনিধিঃ     
গত মাসে রবার্টসন জেটিতে সার্কিট ব্রেকার ব্যবস্থা লঙ্ঘনের জন্য বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) জরিমানা করা সাতজনের মধ্যে ছয়জনকে তাদের ওয়ার্ক পাস বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার সিঙ্গাপুরের জনশক্তি মন্ত্রণালয় (এমওএম) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে একথা। তাদের সিঙ্গাপুরে স্থায়ীভাবে কাজ করতে নিষেধাজ্ঞাও দেওয়া হয়েছে।

কোন ছয়জনকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে নির্দিষ্ট করে তা এখনো মন্ত্রণালয় জানায়নি।

ছয়জন হলো ১৪০ জন ওয়ার্ক পাস হোল্ডারের মধ্যে, যারা এমওএম কর্তৃক সার্কিট ব্রেকার ব্যবস্থা, স্টে-হোম নোটিশ (এসএইচএন) বা কোয়ারেন্টাইন অর্ডার (কিউও) লঙ্ঘন করেছিল।

১৪০ জনের মধ্যে ৪২ জন এসএইচএন বা কিউতে থাকাকালীন তাদের আবাসের বাইরে ধরা পড়ে।

বাকি ৯৮ জনকে সার্কিট ব্রেকার সময়কালে জনসাধারণের মধ্যে খাওয়া দাওয়া, মদ্যপান এবং একসাথে জমায়েত হতে দেখা গেছে।

এমওএম জানিয়েছে, "এগুলি বিভিন্ন ছাত্রাবাস, বেসরকারী আবাসিক অঞ্চল, পূর্ব কোস্ট পার্ক এবং রবার্টসন জেটির মতো বিভিন্ন স্থানে সংঘটিত হয়েছিল।"
আরও বলা হয়েছে যে, সার্কিট ব্রেকার আদেশ অমান্যকারীদের ওয়ার্ক পাস প্রত্যাহার করা ছাড়াও, ব্যক্তিদের সিঙ্গাপুরে স্থায়ীভাবে কাজ করা নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
এমওএম আরও বলেছে যে সিঙ্গাপুরের সমস্ত কাজের পাসধারীদের অবশ্যই আইন মেনে চলতে হবে। যারা আইন মেনে চলবে না তাদের বিরুদ্ধে আইন প্রয়োগকারী পদক্ষেপ নেওয়া অব্যাহত থাকবে।
এতে আরও বলা হয়েছে, "কর্মীরা নিরাপদ দূরত্বের ব্যবস্থাগুলি মেনে চলতে এবং যেখানে প্রয়োজন সেখানে সারিবদ্ধভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও এসএইচএন এর মতো প্রয়োজনীয়তা নিশ্চিত করার জন্য নিয়োগকর্তা এবং ওয়ার্ক পাসের মালিকদের একটি যৌথ দায়িত্ব রয়েছে।" 

এছাড়াও দেশটিতে অবস্থানরত সকল ব্যক্তিদের সরকারের নিয়ম মেনে চলতে বলা হয়েছে। 

মিরসরাইয়ে বাড়ি থেকে যুবককে ডেকে নিয়ে হত্যার চেষ্টা, অভিযোগের প্রস্তুতি

মিরসরাইয়ে বাড়ি থেকে যুবককে ডেকে নিয়ে হত্যার চেষ্টা, অভিযোগের প্রস্তুতি





মিরসরাই প্রতিনিধি
মিরসরাইয়ে মোঃ আরফাত কামাল আকিব (২৫) নামের এক যুবককে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে দূর্বৃত্তরা। উপজেলার ৭ নং কাটাছড়া ইউনিয়নের বামনসুন্দর গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। আহত আকিব ওই এলাকার অবসরপ্রাপ্ত সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা মোঃ কামাল উদ্দিনের পুত্র। এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আকিবের বাবা কামাল উদ্দিন জানান, আমি পরিবার নিয়ে চট্টগ্রাম শহরে থাকি। গত শুক্রবার অসুস্থ হয়ে আমার মা মারা যাওয়ায় সবাইকে নিয়ে গ্রামের বাড়িতে এসেছি। এখন বাড়িতে অবস্থান করছি। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্থানীয় সালাহ উদ্দিন আলেকের ছেলে হৃদয় আমার ছেলে আকিবকে কথা আছে বলে বাড়ি থেকে অদুরে একটি কমিউনিটি সেন্টারের নিচে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে ওই এলাকার মনির আহম্মদ মনিরের ছেলে তৌহিদুন্নবী তারেকের নেতৃত্বে ওৎপেঁতে থাকা ১০-১২ জনের একটি গ্রুপ আমার ছেলেকে রড, লাটি, ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এসময় হৃদয় ও তারেক তাকে প্রাণে মেরে ফেলার চেষ্টা করলে তাঁর আত্মচিৎকারে আশপাশের লোক ছুটে এলে তারা পালিয়ে যায়। মূলত তারা আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। আমার ছেলের সাথে কারো ঝামেলা নেই। সে চট্টগ্রাম সরকারি কমার্স কলেজ থেকে পড়াশোনা শেষ করে চাকরী সন্ধান করছে। খুব একটা গ্রামেও আসে না। আমি বিষয়টি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতিকে অবহিত করেছি। জানা গেছে, হৃদয় ও তারেক এলাকায় বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত রয়েছে। তাদের রয়েছে একটি কিশোর গ্যাং। 

এই বিষয়ে কাটাছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম চৌধুরী হুমায়ুন বলেন, আজ বৃহস্পতিবার আকিবের বাবা কামাল উদ্দিন বিষয়টি আমাকে অবহিত করেছেন। তারা (কামালের পরিবার) পরিবার, এলাকার কারো সাথে ঝামেলা নেই। কিন্তু তাঁর ছেলেকে কেন মারধর করলো বুঝতে পারছিনা। আমি এই বিষয়ে আরো ভালো করে খোঁজ খবর নিচ্ছি।

এই ব্যাপারে জোরারগঞ্জ থানার জৈষ্ঠ উপ-পরিদর্শক মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন, এই ধরনের ঘটনা আমার জানা নেই। যদি কেউ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তাহলে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

লিও ক্লাব অব চিটাগং হিলভিউর ২০২০-২১ সেবা বর্ষের কমিটি ঘোষণা

লিও ক্লাব অব চিটাগং হিলভিউর ২০২০-২১ সেবা বর্ষের কমিটি ঘোষণা




মিরসরাই প্রতিনিধি

অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে লিও ক্লাব অব চিটাগাং হিলভিউর কমিটি  ঘোষণা করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন হিলভিউর বর্তমান প্রেসিডেন্ট লিও ওমর ফারুক ও সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক লিও শুভ ভৌমিক।

উক্ত সংগঠনের উপদেষ্টা লায়ন জিন্নাত কোমর রিতা এবং লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগাং খুলশীর প্রেসিডেন্ট  লায়ন রেজাউল করিম ভূঁইয়া  এবং ক্লাবের সাবেক সভাপতি লিও
হাশমত ইসলাম, এবং পরিচালক লিও ইয়াছিন আরাফাত, লিও রাশেদুল আলম, লিও নুপুর দাশ, লিও সৌরভ সাহা ও লিও অালতাফ হোসেন এর উপস্থিতিতে নতুন কমিটি গঠন করা হয়। এতে  লিও শুভ ভোমিক কে সভাপতি, লিও জুল আসফি উদ্দিন রাকিব চৌধুরী সাধারণ সম্পাদক ও লিও আল মামুন জিসান অর্থ সম্পাদক করে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়।

নবগঠিত কমিটি দেশের এই করোনা মহামারীতে দেশের অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। সেই সাথে লিও ক্লাব অব চিটাগং হিলভিউকে একটি সফল সেবাবর্ষ উপহার দেয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

সরকারি সা'দত কলেজের ছাত্র আতিকুর রহমান আতিক 'লাভ ঘুড়ি' বানালেন

সরকারি সা'দত কলেজের ছাত্র আতিকুর রহমান আতিক 'লাভ ঘুড়ি' বানালেন





আশরাফুল,সরকারি সা'দত কলেজ(টাংগাইল)প্রতিনিধি:'আমরা যখন আকাশের তলে ওড়ায়েছি শুধু ঘুড়ি,তোমরা এখন কলের জাহাজ চালাও গগন জুড়ি’। কবি সুফিয়া কামালের ‘আজিকার শিশু’ কবিতার এ দুই পঙ্‌ক্তি মনে করিয়ে দেয় শৈশবে ঘুড়ি ওড়ানোর সেই আনন্দময় স্মৃতি। এখন করোনার কারণে চলা লকডাউনে অখণ্ড অবসর রাঙাতে ফিরে এসেছে সেই ঘুড়ি ওড়ানো বিকেল।

স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকায় শিশু-কিশোররা যেমন ঘুড়ি ওড়াতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে, তেমনই অফিস-আদালত ও ব্যবসা-বাণিজ্যও বন্ধ থাকায় বড়রাও ঘুড়ি ওড়ানোর প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠেছেন।

২৩-০৬-২০২০ রোজ মঙ্গলবার সরকারি সা'দত কলেজের ২য় বর্ষ মার্কেটিং বিভাগের ছাত্র আতিকুর রহমান আতিক লাভ ঘুড়ি বানিয়ে আকাশে তার ভালোবাসা উড়িয়ে দিলেন।কিভাবে ঘুড়ি বানিয়ে অবসর সময় কাটাচ্ছে যানতে চাইলে তিনি বলেন- "আমি ছোট বেলা থেকেই ঘুড়ি প্রেমি।আমি প্রত্যেকদিন বিকেল হলেই দেখতে পাই  বিভিন্ন ধরনের ঘুড়ি আকাশে উড়ে।যেমনঃচিল ঘুড়ি,চং ঘুড়ি,বেত ঘুড়ি,ডাক ঘুড়ি,সাপ ঘুড়ি,তারা ঘুড়ি ও বক্স ঘুড়ি।স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকায় আমার অবসর সময় কাটাতে আমিও সবার থেকে ভিন্ন ধরনের ঘুড়ি বানালাম "লাভ ঘুড়ি"।আমার বিশেষ ঘুড়িতে আমি বৈদ্যতিক তার ও ব্যাটারি দিয়ে লাল,নীল রংয়ের বাল্ব সংযুক্ত করি তারপর রাতের বেলায়ও ঘুড়িটি উড়াই।আমার লাভ ঘুড়িটির দৈর্ঘ্যপ্রস্থ ৩ফিট ও লেজ প্রায় ২৫ ফিট।বিকেল বেলা যখন লাভ ঘুড়িটি উড়াই তখন গ্রামের কৈশর, বুড়ো,সমবয়সী মানুষ ঘুড়িটি দেখার জন্য ভীর জমায়।অনেকে এমন ঘুড়ি বানিয়ে দেওয়ার জন্য আমাকে প্রস্তাবও করেছেন।"

অধিকাংশ ভবনের ছাদ এবং মাঠে-ময়দানে দেখা যাচ্ছে ঘুড়ি ওড়ানোর উৎসব। অনেকেই আবার ঘুড়ি ওড়ানোর আনন্দ সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে ফেসবুকে ছবি আপলোড করছেন।

তবে শহরের শিশু-কিশোররা বেশিরভাগই ঘুড়ি কিনে উড়িয়ে থাকে। এ কারণে শহরের অধিকাংশ মুদি দোকানেই এখন মিলছে ঘুড়ি। সাধারণ কাগজের তৈরি প্রতিটি ঘুড়ির মূল্য ৫ টাকা হলেও বিশেষভাবে তৈরি চিল ঘুড়ি অথবা অন্য ডিজাইনের ঘুড়ির দাম ১০০ থেকে ১৫০ টাকা। স্কুল বন্ধ থাকায় শিশু-কিশোররা ঘরে বন্দি হয়ে পড়েছে। তাই বিকেলে একটু আনন্দ পেতেই তারা ঘুড়ি ওড়ানোতে মেতে উঠছে।

মাধবপুরে ফেনসিডিলসহ পুলিশের হাতে দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক,

মাধবপুরে ফেনসিডিলসহ পুলিশের হাতে দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক,





লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি 

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় শাহজাহানপুর ইউনিয়নে তেলিয়াপাড়া চা বাগানের বিচ লাইনের ভারতীয় ফেনসিডিল দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) রাতে মাধবপুর থানার অন্তর্গত তেলিয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে ৪৫ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিলসহ।

মাধবপুর উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়নের তেলিয়াপাড়া চা বাগানের বিচ লাইনের মৃত ধীরেন পানতাতী’র ছেলে দ্বিপেন পানতাতী (২১) ও সতেশ তাতী’র ছেলে ইমন তাতী (২০) কে আটক করে। পুলিশ সূত্রে জানা যায় গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তেলিয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির,

ইনচার্জ ইন্সপেক্টর গোলাম মোস্তফা এর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়নের সুরমা চা বাগানের ৮ নম্বর খেলার মাঠের পাশে নিকট পাতি ঘরে অভিযান চালিয়ে ৪৫ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিলসহ,

ইমন তাতী ও দ্বিপেন পানতাতী কে আটক করে ইন্সপেক্টর গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

ইউএনও মাহবুব হাসান’র বিচক্ষণতায় বদলে যাচ্ছে জলঢাকার দৃশ্যপট

ইউএনও মাহবুব হাসান’র বিচক্ষণতায় বদলে যাচ্ছে জলঢাকার দৃশ্যপট




মোঃ হাবিবুর রহমান শাকিল ডিমলা নীলফামারী প্রতিনিধি: 

নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহবুব হাসান’র দক্ষ ও বিচক্ষণতায় বদলে যাচ্ছে জলঢাকার দৃশ্যপট। জনবান্ধব হিসেবে জনগনের মাঝে ঠাঁই করে নেওয়ার মাঝেই রয়েছে তাঁর দক্ষ ও অভিজ্ঞ কর্মকর্তার সফলতা। দক্ষ ও বিচক্ষণতার মধ্য দিয়ে সফলতার সাথে কাজ করতে সক্ষম হয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহবুব হাসান। তাঁর দক্ষ ও বিচক্ষণ এ উপজেলার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে বদলে যেতে শুরু করেছে সর্ব স্তরের দৃশ্যপট। স্বমহিমায় ইউএনও’র দক্ষ ও বিচক্ষণতায় বদলে যাচ্ছে জলঢাকার দৃশ্যপট। জানা গেছে, উপজেলা প্রসাশনের পক্ষ হতে করোনা ভাইরাসের বিস্তার প্রতিরোধক এর ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন (ইউএনও) মোঃ মাহবুব হাসান। বর্তমানের করোনা পরিস্থিতিতে তিনি দক্ষতা ও সাহসিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। 

দিন-রাত মানুষকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। জলঢাকা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় করোনা পজেটিভ ব্যক্তিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছেন তিনি। আবার কখনো কখনো তিনি করোনভাইরাসের কারনে সাধারণ মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম স্থিতিশীল রাখার জন্য বাজার মনিটরিং করছেন। এছাড়াও ইউএনও কার্যালয়ের বিভিন্ন কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও এ কাজ করছেন এবং সাহসিকতার সাথে দায়িত্ব পালন সহ বালুমহল, মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিং, খাদ্যে ভেজালের, মোটরযান এর উপর ব্যাপক প্রসারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছেন। 

তিনি জলঢাকায় পদায়নের পর উপজেলার বিভিন্ন কর্মকান্ড নব রুপে রুপান্তরিত হতে শুরু করেছে। যা এই কয়েক মাসে তাঁর উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড দেখে উপজেলাবাসী সাধুবাদ জানিয়েছেন। তিনি বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে প্রশাংসায় ভাসছেন।

মারা গেলেন সামীম মোহাম্মদ আফজাল

মারা গেলেন সামীম মোহাম্মদ আফজাল


 


আব্দুর রাজ্জাক হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ)প্রতিনিধি 
ইসলামি ফাউন্ডেশনের সাবেক মহাপরিচালক ও ইসলামি ব্যাংক ফাউন্ডেশনের সাবেক চেয়ারম্যান,  যার হাত ধরে আমাদের দারুল আরকাম মাদ্রাসা পদযাত্রা শুরু তিনি চলেগেলেন আজ ২৫ জুন ২০২০ আনুমানিক রাত ১০.২০ মিনিটে বার্ধক্যজনিত কারণে ঢাকা সেন্টাল হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন। ইন্না-লিল্লাহি ওয়াইন্নাইলাইহি  রাজিউন। তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতিগভীর শোক আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। হরিরামপুর উপজেলা (মানিকগঞ্জ)  দারুল আরকাম মাদ্রাসা পক্ষ থেকে।

শহীদ জননী জাহানারা ইমামের ২৬ তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বিনম্র শ্রদ্ধা

শহীদ জননী জাহানারা ইমামের  ২৬ তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বিনম্র শ্রদ্ধা




 

দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুরঃ

শহীদ জননী জাহানারা ইমামের ২৬তম মৃত্যুবার্ষিকী আগামীকাল শুক্রবার। দুরারোগ্য ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ১৯৯৪ সালের এই দিনে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। জাহানারা ইমামের নেতৃত্বে একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং মৌলবাদী-সাম্প্রদায়িক রাজনীতি নিষিদ্ধকরণের দাবিতে নাগরিক আন্দোলন সূচিত হয়েছিল। 

তিনি ১৯৯২ সালের ১৯ জানুয়ারি মুক্তিযুদ্ধের পরে সব রাজনৈতিক দল, সামাজিক-সাংস্কৃতিক-পেশাজীবী, ছাত্র-নারী-মুক্তিযোদ্ধা সংগঠনের সমন্বয়ে গঠন করেন ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন ও একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল জাতীয় সমন্বয় কমিটি।’এই কমিটির উদ্যোগেই ১৯৯২ সালের ২৬ মার্চ ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত গণ-আদালতে গোলাম আযমের প্রতীকী বিচার হয়। 

মুক্তিযুদ্ধের চেতনার যে মশাল তিনি জাতির হাতে তুলে দিয়েছিলেন তারই আলোকে আজ বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হচ্ছে। ছবিতে গণ-আদালতে গোলাম আযমের প্রতীকী বিচার শেষে বিজয়সূচক ভি-চিহ্ন দেখাচ্ছেন শহীদ জননী।