মেসের পর এবার চুরির শিকার বশেমুরবিপ্রবি লাইব্রেরি ভবনের কম্পিউটার

মেসের পর এবার চুরির শিকার বশেমুরবিপ্রবি লাইব্রেরি ভবনের কম্পিউটার



সুমন, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি ঃ করোনার প্রকোপে ক্যাম্পাস বন্ধ হবার পর গোপালগঞ্জে হিড়িক পড়েছিল ছাত্রমেসে চুরির।এবার চুরির ঘটনা ঘটলো লাইব্রেরিতে। 


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একুশে ফেব্রুয়ারি লাইব্রেরি ভবনের জানালা ভেঙে কম্পিউটার ছিনিয়ে নেবার এই ঘটনা ঘটে।প্রায় ৯১ টি কম্পিউটার চুরি হয়েছে বলে জানা যায়।বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার প্রফেসর ড. মোঃ নূরউদ্দিন আহমেদ তথ্যটি নিশ্চিত করেন।


তিনি বলেন,ঈদের পর ক্যাম্পাস সীমিত পরিসরে খোলার পর ঘটনা জানতে পারি।তবে মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।


চুরির বাজার যেন নিত্যকার হয়ে দাড়িয়েছে।এর আগেও চুরির দায়ে মামলা হলেও গ্রেফতার হন নি কেউ।


জানতে চাইলে অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র সাদ আহমেদ বলেন,এটা ভাই প্রশাসনের কিছুটা গাফিলতি।


তবে আর যাই হোক প্রকৃত অপরাধীদের চিহ্নিত করতে কে না চায়?

আশাশুনিতে বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সেলাই মেশিন বিতরণ

 আশাশুনিতে বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সেলাই মেশিন বিতরণ




আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধি ঃ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছার ৯০ তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে আশাশুনিতে আলোচনা সভা ও সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠান করা হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 


উপজেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর আশাশুনির আয়োজনে “বঙ্গমাতার ত্যাগ ও সুন্দরের সাহসী প্রতীক” প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে আলোচনা রাখেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানা। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ সাইদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, মহিলা অধিদপ্তরের প্রশিক্ষক সরমীন চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জেসমিন নাহার ও গীতা পাঠ করেন, অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর দীপঙ্কর মন্ডল। অনুষ্ঠানে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে বরাদ্দকৃত ৬টি সেলাই মেশিন

সেট ৬ জন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও অসহায় দুস্থ মহিলাদের মাঝে বিতরণ করা হয়। উল্লেখ্য, এবছর দেশের সকল উপজেলায় ৬টি করে ও গোপালগঞ্জ উপজেলায় ২০টি সেলাই মেশিন সেট বিতরণ করা হয়েছে।

সাংবাদিক জাহের ফকির এর মাগফেরাত কামনায় মিলাদ মাহফিল

 সাংবাদিক জাহের ফকির এর মাগফেরাত কামনায় মিলাদ মাহফিল



লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃহ

বিগঞ্জের মাধবপুরে প্রগতিশীল বয়োজ্যেষ্ঠ  সাংবাদিক জাহের মিয়া ফকির স্মরণে মাধবপুর থানা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে রোববার (৯-আগষ্ট) মিলাদ মাহফিল ও স্মরনসভাঅনুষ্ঠিত হয়েছে।প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ মহিউদ্দিন সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাব্বির হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত শোকসভায় সিনিয়র মরহুম জাহের মিয়া ফকিরের।


পেশাগত দায়িত্ব পালনের কর্মবহুল জীবনের উপর স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন সিনিয়র সাংবাদিক রোকন উদ্দিন লস্কর, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আলাউদ্দিন আল-রনি, বর্তমান সহ-সভাপতি হিরেশ ভট্রাচার্য, আইয়ুব খান, দপ্তর সম্পাদক রাজিব দেব রায়, যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর কবির, কাউসার আহমেদ অলিদ মিয়া সুব্রত দেব রায়। 


কে এম শামসুল হক মিজানুর রহমান অনিক প্রমুখ। স্মরনসভায় মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন তার বড় ছেলে রোকন মিয়া।

স্মরনসভা শেষে মিলাদ ও দোয়া পরিচালনা করেন কে এম সামসুল হক ও মির্জা হাসান। উল্লেখ্য ৬-আগষ্ট দুপুরে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

আশাশুনির তেুঁতুলিয়া গ্রামের তাণ্ডবের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

 আশাশুনির তেুঁতুলিয়া গ্রামের তাণ্ডবের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন



 

আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধি   ঃ আশাশুনির তেুঁতুলিয়া গ্রামের তাণ্ডবের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করে আশাশুনি প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন দুই পক্ষ। 

রবিবার (৯ আগষ্ট) সকাল ১১টায় আশাশুনি প্রেসক্লাবে হাজির হয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বর্বরোচিত তাণ্ডবে সর্বস্ব হারিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত তেঁতুলিয়া গ্রামের আবু হাসানের স্ত্রী রোজিনা খাতুন। 

তিনি বলেন- শুক্রবার মাদ্রাসা ছাত্র নাজিমের ঘটনাকে কেন্দ্র করে তেঁতুলিয়া গ্রামের রফিকুল সরদার, রবিউল সরদার, রুবেল সরদার, আলাউদ্দীনের নেতৃত্বে মসজিদে মাইকিং করে লোক জড়ো করে শতাধিক লোকজন দা, লাঠি, শাবল, হাতুড়ি নিয়ে আমার বাড়ী সংলগ্ন দোকানে হাজির হয়। এরপর শুরু হয় দোকানের সার্টার, জানালা ভাংচুর ও মালামাল লুটপাট। তারা ইট-পাটকেল ছুড়তে ছুড়তে বাড়ীর ভেতরে ঢুকে আমার মা কহিনুর বেগমকে মারপিট করে তার মুখে কালি লাগিয়ে দেয় এবং মারাত্মক আহত করে। হামলাকারীরা মায়ের টালির ঘর ভাংচুর করার পর আমার বিল্ডিংয়ের ছাদ, দুটি পানির ট্যাংকি,মটর সোলার, বৈদ্যুতিক মিটারসহ বিল্ডিংয়ের ভেতরে ৪টি রুমে থাকা যাবতীয় মালামাল লুটপাট ও ভাংচুর করে। এমনকি তারা আমার ঘরে রক্ষিত চাউল ও পরিধেয় কাপড়-চোপড় নিয়ে নদীতে ফেলে দিয়েছে। তাদের দাপটে হামলায় প্রচণ্ড অসুস্থ মা কহিনুর কে সন্ধ্যায় লোকচক্ষুর আড়ালে সাতক্ষীরা সদরে চিকিৎসা নিতে যেতে হয়েছে। বর্তমানে সেখানেই আমার মা মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। ওই দিন যদি থানাপুলিশ ঘটনাস্থলে না আসতেন তাহলে প্রতিপক্ষরা আমাদের মেরেই ফেলতেন। 

এদিকে প্রতিপক্ষের প্রকাশ্যে হুমকি-ধামকি শুনে বাড়ী যাওয়া নিরাপদ না বিধায় গত দুই দিন ধরে আমি আমার শিশু ছেলেকে নিয়ে হাসপাতালে ও আত্মীয়দের বাসায় থাকতে বাধ্য হচ্ছি। আমি ও আমার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। হামলাকারীদের তাণ্ডবে আমার সাজানো সংসারের যাবতীয় মালামাল ধ্বংস হয়ে গেছে। দুই দিন যাবত প্রায় এক কাপড়ে চলাচল করতে হচ্ছে। বাড়ীতে পানি খাবার মত একটি গ্লাসও অবশিষ্ট নেই। 

আমাকে সর্বশান্ত করার পরও হামলাকারী রফিকুল, রবিউল গংরা থেমে নেই। তারা বিষয়টাকে ধর্মীয় ইস্যু সৃষ্টি করে আমাকে জড়িয়ে নানা রকম কুৎসা রটিয়ে প্রশাসন ও সাংবাদিকদের বিভ্রান্ত করে চলেছে। আমি বা আমার মা কোন অন্যায় করে থাকলে দেশের প্রচলিত আইনে আমাদের যে শাস্তির বিধান আছে তা মাথা পেতে নিতে কোন আপত্তি নেই। কিন্তু যারা উদ্দেশ্য প্রনোদিত হয়ে আমাদের ক্ষতি করেছে আমি তাদের আইনানুগ শাস্তি চাই। হামলাকারীরা এখনও প্রকাশ্যে আমাদের প্রাননাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। সঠিক তদন্ত পূর্বক প্রকৃত দোষীদের আইনানুগ শাস্তি ও রোজিনা খাতুনের পরিবারের নিরাপত্তার দাবী জানিয়ে প্রশাসনের উর্ধতন কতর্ৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটি। 

অপরদিকে একই দিন বিকালে আশাশুনি প্রেসক্লাবে হাজির হয়ে এই ঘটনার প্রতিপক্ষদের পক্ষে অবস্থান নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেছেন তেঁতুলিয়া গ্রামের লাল মাহমুদ সরদারের ছেলে সমাজসেবক লুৎফর রহমান। তিনি স্থানীয় মেম্বর আইয়ুব আলী সরদারসহ অর্ধশতাধিক লোক নিয়ে লিখিত ও মৌখিক বক্তব্যে বলেন- রোজিনা খাতুন তার নিজ বাড়ীতে দীর্ঘদিন ধরে দেহ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। এ নিয়ে কয়েকবার শালিস করা হলেও সে শুধরায়নি বরং সমাজের কারও তোয়াক্কা না করে আরও অশালিন কর্মকাণ্ডের মাত্রা বৃদ্ধি করেছে। শুক্রবার ভোরে তারা পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক মাদ্রাসা ছাত্র নাজিমকে ধরে ঘরে আটকে রেখে মুখে আলকাতরা মাখিয়ে দেয়। সকালে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে নাজিমকে উদ্ধার করে স্থানীয় মেম্বরের কাছে নেওয়া হয়। এ ব্যাপারে কহিনুর বেগমের কাছে শুনতে গেলে তারা উল্টো আমাদের গালি-গালাজ শুরু করে ইটপাটকেল ছুঁড়তে আরম্ভ করে। মাদ্রাসা ছাত্রের উপর হামলার এ ঘটনায় স্থানীয় জনতা ক্ষিপ্ত হয়ে রোজিনার বাড়ীতে হামলা চালায়। রোজিনা মসজিদ-মাদ্রাসার পাশেই দিনদুপুরে মেকাপ করে দেহ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। সে রাস্তায় চলাচলরত পথিককে কৌশলে ডেকে বাড়ীর ভেতরে নিয়ে তার সর্বস্ব লুট করে থাকে। এর প্রতিবাদ করলে তারা ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ তুলে তাদের বেকায়দায় ফেলে থাকে। তার এহেন কর্মকাণ্ডে অতিষ্ঠ হয়ে গ্রামবাসীরা ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে মসজিদের পাশ থেকে উচ্ছেদ করে ধর্মীয় মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে তৎপরতা দেখিয়েছে। এছাড়া রোজিনা মামলায় নিরীহ মানুষকে হয়রানী করতে রফিকুল হাজী ঘটনাস্থলে না থাকলেও তাকে জড়িয়ে মামলা দায়ের করেছে। আমরা গ্রামবাসীর পক্ষে মসজিদ-মাদ্রাসার পবিত্রতা বিনষ্টকারী চরিত্রহীন এই রোজিনার হাত থেকে রেহাই পেতে প্রশাসনের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। 

এ ঘটনায় আশাশুনি থানা অফিসার ইনচার্জ গোলাম কিবরিয়া জানান- তেঁতুলিয়ার ভাংচুরের ঘটনা শুনেই ফোর্স নিয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসি। এ ঘটনায় রোজিনা বাদী হয়ে ১৭ জনের নাম উল্লেখসহ ২২ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে ৬(৮)২০ নং একটি মামলা দায়ের করেছেন। কেউই আইনের উর্ধে নন। তদন্তপূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেরপুর জেলা জবিয়ান ফোরামের যাত্রা শুরু

শেরপুর জেলা জবিয়ান ফোরামের যাত্রা শুরু




জবি প্রতিনিধিঃ

বাংলাদেশের অন্যতম বিদ্যাপিঠ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। পুরান ঢাকার বুকে মাথা উচিয়ে শিক্ষার বার্তা ছড়িয়ে দিচ্ছে বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে। সারা দেশের মতো শেরপুর জেলা থেকেও অনেক শিক্ষার্থী জবিতে অধ্যয়ন করে থাকে। জবি থেকে উচ্চশিক্ষা নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে কৃতিত্বের সাথে কাজ করে যাচ্ছে জবিয়ানরা। অন্যান্য জেলা হতে শেরপুর জেলায় চাকরিরত জবিয়ান ও শেরপুর জেলার জবিয়ানদের নিয়ে যাত্রা শুরু করে এই সংগঠন।


এই জবিয়ান ফোরামে সাবেক জবিয়ান সহ বর্তমান শেরপুর জেলার জবিয়ানরা এতে অংশগ্রহণ করে। জবিয়ানের পাশে জবিয়ান এই স্লোগান নিয়ে যাত্রা শুরু করে এই সংগঠন। এই সংগঠনের কাজ শেরপুর জেলার যে কোন জবিয়ানের পাশে দাঁড়ানো এবং তাদের নানান সময়ে দিকনির্দেশনা প্রধান করে তাদের যে কোন সমস্যায় পাশে থাকাই এই সংগঠনের মূল লক্ষ্য।


শেরপুর জেলা জবিয়ান ফোরামের আহবায়ক মো: জসিম উদ্দিন বলেন, আমরা এই সংগঠন নিয়ে অনেক দূর এগিয়ে যেতে চাই। যে কোন সমস্যায় আমরা জবিয়ানরা জবিয়ানদের পাশে থাকব।

নবীনগরে স্কুল-কলেজ সহ বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনে সরকারি খেলার সামগ্রী বিতরণ

 নবীনগরে স্কুল-কলেজ সহ বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনে সরকারি খেলার সামগ্রী বিতরণ


 এস.এম অলিউল্লাহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধিঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে রবিবার(৯/৮)দুপুরে জাতীয় সংসদ সদস্য এবাদুল করিম বুলবুল মহোদয় সরকার থেকে আনা বিভিন্ন খেলার সামগ্রী বিতরণ করা হয়।


যুব সমাজকে মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কর্তৃক স্কুল-কলেজ সহ বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনের মাঝে ফুটবল, ক্রিকেট, ব্যাডমিন্টন, দাবা

ভলিবল ও কেরামবোর্ড বিতরন করা হয়।


উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনিরের নেতৃত্বে ক্রীড়া সামগ্রী বিতরন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মাসুম, চেয়ারম্যান আজহার হোসেন জামাল, উপজেলা আ'লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সফিকুল ইসলাম, সাংবাদিক সঞ্জয় সাহা ও উপজেলা আ'লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক নাছির উদ্দিন, নবীনগর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ পারভেজ হোসেন ও সাংবাদিক সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দ।

মোংলার কেওড়াতলার নিরীহ পরিবারের চলাচলের পথ জবর দখল করে রাখার অভিযোগ ভূমিদস্যু আঃ বারীর বিরুদ্ধে

 মোংলার কেওড়াতলার নিরীহ পরিবারের চলাচলের পথ জবর দখল করে রাখার অভিযোগ ভূমিদস্যু আঃ বারীর বিরুদ্ধে


মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি:

মোংলার কেওড়াতলা এলাকার একটি নিরিহ পরিবারের চলাচলের একমাত্র রাস্তা দখল করে রাখার অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী ভূমিদস্যু আ: বারীর বিরুদ্ধে। একই সাথে তার বিরুদ্ধে এই এলাকার আরো কয়েক ব্যক্তির ভূমি দখল ও হুমকি ধামকির দেয়ার ঘটনায় থানায় একাধিক লিখিত অভিযোগ এবং সাধারণ ডায়েরী করেছে ভুক্তভোগীরা। 


থানায় দাখিলকৃত অভিযোগ ও জিডির প্রেক্ষিতে জানা যায়, পৌর শহরের কেওড়াতলা এলাকায় একই ব্যক্তির কাছ থেকে জমি ক্রয় করেন কবির হোসেন ও অভিযুক্ত আঃ বারী। এরপর প্রভাবশালী আঃ বারী খরিদকৃত জমির পাশের রাস্তার জায়গাটুকুও দখল করে নেন। এদিকে ভূমি খরিদের পর মৃত্যু হয় কবির হোসেনের। তার অসহায় স্ত্রী সন্তান বারীর পিছনের অংশে বসবাস করতে থাকেন। তাদের খরিদকৃত জমির দলিলে তিন ফুট রাস্তার উল্লেখ থাকলেও জোরপূর্বক সেটি দখল করে রেখেছেন প্রভাবশালী আবদুল বারী। ন্যায় বিচার আর চলাচলের রাস্তা পেতে অপর বাসিন্দা মরহুম নুর ইসলামের স্ত্রী সূর্য্য বানু একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন মোংলা থানায়। একই এলাকার বাসিন্ধা দন্ত চিকিৎসক মোঃ নুরুল ইসলামের মালিকানাধীন ভূমি জোরপূর্বক দখল নেয়ার জন্য তার সাথে প্রতিনিয়ত বিবাদ তৈরী করছেন আঃ বারী। এমন দাবী করে তিনিও মোংলা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। স্থানীয় আরেক বাসিন্দা মোঃ শাহাদাৎ হোসেনের ভূমি দখলে নেয়ার জন্য তার সাথেও দীর্ঘদিন বিরোধ তৈরী করে তাকেও নানা হুমকি ধামকি দেয়া হচ্ছে বলে মোঃ আঃ বারী ও তার দুই সন্তান নাইম মোল্লা ও হোসাইন মোল্লার বিরুদ্ধে মোংলা থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন তিনি।


সাধারন ডায়েরী ও অভিযোগকারীরা জানান, আবদুল বারী মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার বিভাগে চাকুরী করতেন। একই সাথে তিনি জামায়াতের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। এলাকায় তিনি একটি শক্তিশালী ভূমিদস্যু বাহিনী তৈরী করেছেন। লালন পালন করেন কিছু মাদকসেবী।  তার অত্যাচারে আমাদের মতো অনেক নিরিহ মানুষ হয়রানীর শিকার হচ্ছেন। তার অত্যাচার থেকে রক্ষা পেতে আমরা থানা পুলিশের সহায়তা চেয়েছি। পুলিশের নির্দেশনাও মানছেন না প্রভাবশালী আঃ বারী।


এ বিষয়ে মোংলা থানার এসআই অমিত কুমার বিশ্বাস বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়ে বাদী-বিবাদীকে ডেকে তাদের কাগজপত্র দেখেছি। অভিযোগকারী সূযর্য বানুর দলিলে চলাচলের রাস্তার কথা উল্লেখ রয়েছে। জমিজমা নিয়ে যাতে কোন প্রকার বিরোধ সৃষ্টি না হয় সেজন্য রাস্তা ছেড়ে তাদেরকে দলিল মোতাবেক মাপঝোপ করে নেয়ার জন্য বলা হয়েছে। 


এ বিষয়ে আঃ বারী বলেন, দলিলেও উল্লেখ থাকলেও তিনি রাস্তা দিতে পারবেন না। চলাচলে সমস্যা হলে সূযর্য বানুর সম্পত্তি তার কাছে বিক্রি করে দিতে পারেন। এদিকে এ বিষয়ে সংবাদ না করার জন্য তিনিসহ ছাত্রদলের পরিচয়বহনকারী এক মাদকসেবীকে দিয়ে সাংবাদিকদের ম্যানেজের অপচেষ্টাও চালান। 

ছুটি বাড়লো বশেমুরবিপ্রবিতে, চালু থাকবে জরুরী সেবা ও দাপ্তরিক কাজ

 ছুটি বাড়লো বশেমুরবিপ্রবিতে, চালু থাকবে জরুরী সেবা ও দাপ্তরিক কাজ



সুমন,বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি ঃ করোনার বিষাক্ত ছোবলের মুখে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত ছুটি বাড়বে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে( বশেমুরবিপ্রবি)। এ খবরটি নিশ্চিত করেছেন বশেমুরবিপ্রবি'র রেজিস্টার প্রফেসর ড. মোঃ নূরউদ্দিন আহমেদ।গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারীকৃত ছুটির  অংশ হিসেবে এই ছুটি বাড়ানো হলো।


রেজিস্টার স্যার সাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের দাপ্তরিক কাজ পরিচালনা ও জরুরী প্রয়োজনের জন্য মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর দপ্তর,প্রকৌশল দপ্তর,পরিকল্পনা উন্নয়ন ও ওয়ার্কস দপ্তর,হিসাব দপ্তর,রেজিস্টার অফিস,পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক দপ্তর এবং কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি আগামী ০৯ আগস্ট ২০২০ তারিখ থেকে সীমিত পরিসরে খোলা থাকবে।


অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের জরুরী সেবাসমূহ, যেমন- পানি,বিদ্যুৎ এবং নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট কর্মকাণ্ড যথারীতি অব্যাহত থাকবে।


তবে ক্লাস, পরীক্ষা ও আবাসিক হলসমূহ পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।


উল্লেখ্য, করোনা নামক বেশ্বিক মহামারীতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ মোতাবেক ছুটির অংশ হিসেবে এই ছুটি বাড়ানো হলো।

রাজ পরিবারের প্রথা অনুযায়ী নৌপথে দিনাজপুরের উদ্দেশ্যে শ্রীশ্রী কান্তজীউ বিগ্রহের যাত্রা শুরু

 রাজ পরিবারের প্রথা অনুযায়ী   নৌপথে দিনাজপুরের উদ্দেশ্যে শ্রীশ্রী   কান্তজীউ বিগ্রহের যাত্রা শুরু




মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি  ॥ রাজ পরিবারের প্রথা অনুযায়ী দিনাজপুরের ঐতিহ্যবাহী কান্তনগর মন্দির হতে শ্রী শ্রী কান্তজীউ বিগ্রহ নৌপথে দিনাজপুর শহরের রাজবাটীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছে। তবে এবার প্রানঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমন এড়াতে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি মানাসহ বাড়তি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সেই সাথে ভক্ত ও পূণ্যার্থীদের সমাগম করতেও নিষেধ করা হয়েছে। রাত ৮ টার দিকে দিনাজপুর রাজবাটিতে পৌছাবে বলে জানা গেছে।

৯ আগষ্ট ২০২০ রোববার সকাল সাড়ে ৭ টায় দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার কান্তনগরে শ্রী শ্রী কান্তজীউ বিগ্রহ নৌপথে দিনাজপুর শহরের রাজবাটীর উদ্দেশ্যে যাত্রার উদ্বোধন করেন দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও হিন্দু কল্যাণ ট্রাষ্টের সহ-সভাপতি মনোরঞ্জন শীল গোপাল ।

ঐতিহ্যবাহী কান্তনগর মন্দির হতে পূজা অর্চনা শেষে কান্তজীউ বিগ্রহ ঢেপা নদীর কান্তনগর ঘাটে আনা হয়। সেখান থেকে নৌবহর নিয়ে যাত্রা শুরু হয় দিনাজপুর শহরের সাধুর ঘাটের উদ্দেশ্যে। দীর্ঘ প্রায় ২৫ কিলোমিটার নদীপথে নৌকাযোগে দিনাজপুর আসার সময় চিরাচরিত নিয়মানুযায়ী বিগত সময়ে হিন্দু ধর্মালম্বী লাখ লাখ ভক্ত নদীর দু’কুলে কান্তজীউ বিগ্রহকে দর্শনের জন্য ভীড় জমালেও এবার তার চিত্র ছিল ভিন্ন। সকলে নিজ নিজ স্বাস্থ্য বিধি মেনে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে নদীর দুই কুলে কান্তজীউ বিগ্রহকে দেখতে আসে ভক্তবৃন্দ। বিভিন্ন স্থান থেকে আগত হিন্দু পূর্ণ্যার্থীরা তাদের বাড়ীর বিভিন্ন ফল, দুধ ও অন্যান্য সরঞ্জামাদী নিয়ে শ্রী শ্রী কান্তজীউ বিগ্রহকে উৎসর্গ করার জন্য নিয়ে আসে। 

কান্তনগর ঘাট থেকে দিনাজপুর শহরের সাধুরঘাট পর্যন্ত ৩০টি ঘাটে কান্তজীউ বিগ্রহ বহনকারী নৌকা ভিড়ানো হবে। এ কারণে বিভিন্ন ঘাটে ও শহরের বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। প্রতিটি ঘাটেই পূর্ব থেকে পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে। রাত সাড়ে ৮ টায় কান্তজীউ বিগ্রহ সাধুঘাটে এসে পৌছালে দিনাজপুর রাজদেবোত্তর এষ্টেটের সভাপতি ও জেলা প্রশাসক জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম সহ প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা কান্তজিউ বিগ্রহ গ্রহন করবেন। পরে বিগ্রহটি শহরের বিভিন্ন মন্দিরে পুজা-অর্চনা শেষে রাজবাড়ী মন্দিরে নিয়ে যাওয়া হবে। 

উদ্বোধনের সময় দিনাজপুর-১ আসনের এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেন, রাজ পরিবারের রীতি অনুযায়ী কান্তজীউ বিগ্রহ ৯ মাস কান্তনগর মন্দিরে এবং ৩ মাস দিনাজপুরের শহরের রাজবাড়ীতে অবস্থান করেন। সেই প্রথা অনুযায়ী যুগযুগ ধরে এই নিয়ম চলে আসছে। তবে এবার প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে ভক্তবৃন্দের উপস্থিতি সীমিত ছিল। এই তিনমাসে রাজবাড়ীতে প্রতিদিন প্রভাতী নামকীর্ত্তণ ও প্রতি বাংলা মাসের প্রথম শনিবার কমিটির পক্ষ থেকে ভোগের ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়াও বিভিন্ন ভক্ত প্রতিদিন ভোগের ব্যবস্থা করে থাকেন। 

এছাড়া বিশেষ প্রার্থনায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সুস্থতা ও নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা এবং জাতির মঙ্গল কামনায় বিশেষ প্রার্থনায় করা হয়। এসময় বাংলাদেশসহ পুরো বিশ্ব যাতে এই মহামারি থেকে দ্রুত রক্ষা পায় সে প্রার্থনাও করা হয়।

আজ রোববার দিবাগত রাত ১২টায় শ্রী শ্রী কান্তজিউ বিগ্রহ দিনাজপুরের রাজবাড়ী কান্তজিউ মন্দিরে স্থাপন করা হবে বলে জানা গেছে।

আগামী ১৩ আগষ্ট মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্র.শুভ উদ্ভোধন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

 আগামী ১৩ আগষ্ট মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্র.শুভ উদ্ভোধন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত




প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

প্রিয় সম্মানিত শুভাকাঙ্ক্ষীবৃন্দ। 

আসসালামু আলাইকুম।


অত্যন্ত আনন্দের সাথে জানাচ্ছি যে, একটি সম্পূর্ণ মানব সেবামৃলক প্রতিষ্ঠান"মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্র.নামে-যাত্রা শুরু করেছে। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হচ্ছে আগামী বৃহস্পতিবার, ১৩ আগষ্ট ২০২০, সকাল ৯.০০  ঘটিকায়।


উক্ত উদ্বোধনী ও দোয়া অনুষ্ঠানে দেশের অভিজ্ঞ হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক,শিক্ষক,আলেম সমাজ,শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক, প্রশাসনিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন, ইনশাআল্লাহ।


আলোচ্য সৃচী:

♦কুরআন থেকে বাংলা অনুবাদ সহ পাঠ

♦শুভ উদ্ভোধন ও দোয়া মাহফিল

♦উপস্হিতিদের মাঝে মাস্ক বিতরণ

♦দরিদ্র ও অসহায়দের মাঝে ফ্রি চিকিৎসা ও মেডিসিন বিতরণ

♦তবারক বিতরণ


সুতরাং একটি আধুনিক ও বিজ্ঞান সম্মত হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান "মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্র.প্রধান কার্যালয়, নাগরপুর,টাংগাইল-শুভ উদ্বোধন ও দোয়া অনুষ্ঠানে আপনার উপস্থিত একান্ত ভাবে কামনা করছি।


            ধন্যবাদান্তে-

         ডা.এম.এ.মান্নান

প্রতিষ্ঠাতা ম্যানেজিং ডিরেক্টর     মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্র.আইয়ূব আলী সুপার মার্কেট(পুরাতন বেবী স্ট্যান্ড)নাগরপুর,টাংগাইল মোবাইল নং-০১৭২১৪০৬৭২০ mannan4ulive@gmail.com

আমার মুজিব আল জিহাদ

আমার মুজিব  আল জিহাদ




হয়েছে জন্ম সেকেলে

জন্ম তার

রঙ্গিন আকাশের নিচে

লুৎফর রহমানের ঘরে ।


ডেকেছে আদর করে

খোকা তার নাম

রেখেছে সোহাগ করে

মুজিবুর রহমান।


টুঙ্গি পাড়া গ্রামে

শিশু থেকে কিশোর হয়ে ওঠে

সর্বসময় থাকে মেতে

মানুষের উপকারে ।


বড়দের সম্মান করে

ছোটদের স্নেহ

এরই মাঝে হয়ে ওঠে

লোকেদের স্পন্দন।


শুরু হলো শোষণ বিধি

পশ্চিমের হানাদারের

বাংলার মানুষ শইতে না পেরে

কেদেঁ কেঁদে  মরে।


খুশির হাওয়া এসে বলে

এসেছে আগুন রঙ্গে

মুক্তি কে ভর করে

বঙ্গবন্ধু নাম করে ।


হানাদার আতঙ্ক হলো

জালাময়ী সে ভাষণ

লোকে বুঝি চিঠি পেলে

মুক্তির সুঘ্রাণে।


সে ভাষণে কাঁপছে হানাদার

দশ লক্ষ মানুষের সংগ্রাম

বিদ্রোহ হয়ে ওঠে সকলে

একাত্তরে সাতই মার্চে ।

খুলনায় জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে আওয়ামীলীগের প্রস্ততি সভা

 খুলনায় জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে  আওয়ামীলীগের প্রস্ততি সভা




তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা প্রতিনিধিঃ

খুলনা মহানগরের অন্তগর্ত ০৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের উদ্যোগে গত কাল আট নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অফিসে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।   উক্ত সভার সভাপতিত্ব করেন ০৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি জনাব আব্দুস সত্তার লিটন। এসভায় আরো উপস্থিত ছিলেন কেসিসি ০৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এইচ.এম ডালিম হাওলাদার সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীবৃন্দ।


খুলনা নগর আওয়ামীলীগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৫ ই আগস্ট যোহর নামাজ বাদ ওয়ার্ডের প্রতিটি মসজিদে বিশেষ দোয়া-মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে ও তোবারক বিতরণ করা হবে।

মাছ চোর সোহরাবের খুটির জোর কোথায়?

 মাছ চোর সোহরাবের খুটির জোর কোথায়?

 



আহসান উল্লাহ  বাবলু  উপজেলা প্রতিনিধি : মাছ চুরি করার সময় হাতেনাতে ধরা পড়ে উল্টো থানায় মামলা দেওয়ার পায়তারা করছে শ্রীউলা ইউনিয়নে কুখ্যত মাছ চোর সোহরাব। সোহরাব কলিমাখালী গ্রামের আব্দুল হাকিমের সেজ পুত্র। গত মঙ্গলবার রাতে একই গ্রামের (সোহরাবের পাশের বাড়িতে) মৃত মহব্বত আলীর পুত্র গোলাম মোর্তজার বাড়ির পুকুরে পানির মধ্যে সংরক্ষন করে রাখা মাছ চুরি করে বিক্রির সময় মাছসহ চোর সোহরাবকে ধরে ফেলে স্থানীয়রা।পুনরায় চুরি করবে না এ স্বর্তে তাকে কয়েকটি চড়- থাপ্পড় দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। ওই দিন কলিমাখালী গ্রামের মোটরসাইকেল চালক দীলিপকে স্বাক্ষী মেনে মাছ বিক্রির টাকা ফিরত দিতে রাজী হন সোহরাব।কিন্ত শনিবার বিকালে তার কাছে টাকা চাইতে গেলে লোহার রড নিয়ে তেড়ে আসে গোলাম মোর্তজার ছোট ভাই শাহাদাৎ হোসেনকে মারার জন্য। এ সময় উপস্থিত থাকা বকচর গ্রামের মুরাদ, সুজায়েত, আলতাফ সোহরাবকে আটকাতে গেলে তার রডের আঘাতে আহত হন মৎস ব্যবসায়ী আলতাফ। এ ঘটনায় তাকে এলাকার লোকজন গণপিটুনি দিলে সে থানায় মামলা করার হুমকি দেয়।

এর আগে বহু চুরির রিমান্ডে নেওয়া আসামী সোহরাব নিপুন সু এর সত্ব অধিকারী মৃত সেলিম সাহেবের লাঙ্গলদাড়িয়া মৎস ঘেরে চুরি করতে গিয়ে অস্ত্র সহ ধরা পড়ে। এ ঘটনায় তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে রিমান্ডে নেওয়া হয়।

বহুল আলোচিত এই সোহরাব মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত বলে জানান স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি। বহুদিন ধরে সে এলাকায় ইয়াবা ব্যবসা করে আসছে বলে জানান তারা।মাছ চোর সোহরাবকে রুখতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে কামনা করেছেন স্থানীরা

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন আজ থেকে শুরু

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন  আজ থেকে শুরু


 মিঠুন কুমার রাজ, জেলা প্রতিনিধিঃ

আজ রবিবার (০৯ আগস্ট) থেকে শুরু হচ্ছে একাদশ শ্রেণিতে (২০২০-২০২১) ভর্তির আবেদন। আগামী ২০ আগস্ট পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে।


 শুধামাত্র অনলাইনে প্রথম ধাপে এ আবেদন করা যাবে। করোনা পরিস্থিতির কারণে এ বছর একাদশ শ্রেণির ভর্তির প্রক্রিয়া থমকে যায়। 


একাদশ শ্রেণি কলেজ ভর্তির আবেদন সংক্রান্ত ওয়েবসাইটের ঠিকানা www.xiclassadmission.gov.bd


কেন্দ্রীয়ভাবে প্রথম পর্যায়ের এ আবেদন শুরেু হচ্ছে বলে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বোর্ড, ঢাকার উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।


বিগত বছরের ন্যায় এবারও এসএসসি রেজাল্টের উপর ভিত্তি করে প্রার্থী বাছাই করা হবে। একজন শিক্ষার্থী  সর্বনিম্ন ০৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন । তাছাড়া সকল যোগ্যতার মাপকাঠিতে যে যোগ্য তাকেই ভর্তির জন্য বাছাই করা হবে।

সেভ দ্য রোড-এর রেশমা স্মরণে আলোচনা-দোয়া সভা

 সেভ দ্য রোড-এর রেশমা স্মরণে আলোচনা-দোয়া সভা




প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ  
সেভ দ্য রোড-এর উদ্যেগে রেশমা স্মরণে আলোচনা ও দোয়া সভা বাংলারিপোর্ট কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৮ আগস্ট সন্ধ্যা ৭ টায় অনুষ্ঠিত ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, পথে আর কত প্রাণ যাবে বলতে পারেন?’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন সেভ দ্য রোড-এর মহাসচিব শান্তা ফারজানা। সেভ দ্য রোড-এর প্রতিষ্ঠাতা মোমিন মেহেদীর সভাপতিত্বে অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতি(বানাসাস)-এর সাধারণ সম্পাদক আনজুমান আরা শিল্পী ও মেস সংঘের মহাসচিব আয়াতুল্লাহ আকতার।   এসময় বক্তারা বলেন, রেশমা জাহান রতœার মত শত শত মেধাবী মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছে চরম সড়ক অব্যবস্থাপনা- নৈরাজ্যর কারণে। উত্তরণে সড়কপথে সচেতনতা বাড়াতে হবে, কঠোর হতে হবে শাস্তি দেয়ার ক্ষেত্রেও। একই সাথে রেশমার উপর নির্মমভাবে চাপিয়ে দেয়া মাইক্রোর চালককে গ্রেফতারের দাবী জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, এর আগে গত  ৮ মে সেভ দ্য রোড-এর পক্ষ থেকে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় এই ৪ প্রস্তাব দেয়া হয়- ১. সরকারিভাবে স্যানিটাইজার ও পরিচ্ছন্নতা তদারকির জন্য সেনা বাহিনীর একটি বিশেষ টিমকে দায়িত্ব দেয়া ২. কোনভাবেই যেন ভাড়া বৃদ্ধি না হয় এবং স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ না হয়; সেই লক্ষ্যে অবশ্যই স্টপেজ ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা। ৩. সেভ দ্য রোড-এর সারাদেশে ৪৭ জেলা কমিটির ৪৭ জন ও কেন্দ্রীয় কমিটির কমপক্ষে ২০ জনকে যোগাযোগ সেক্টরের জেলা ও কেন্দ্রীয় সকল পদক্ষেপে যুক্ত রাখা এবং ৪. সর্ববকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার সাথে সাথে কঠোরভাবে বাংলাদেশের সড়ক ব্যবস্থাকে নিয়ন্ত্রণের জন্য দুর্নীতি-ঘুষ বন্ধে সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দেয়া হোক।

ঝিনাইদহের পোড়াহাটি গ্রামের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী নাসির আটক

 ঝিনাইদহের পোড়াহাটি গ্রামের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী নাসির আটক



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি:ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কলমনখালী থেকে নাসির উদ্দিন নামের এক কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ীকে গাজাসহ আটক করেছে সদর থানা পুলিশ। শনিবার রাতে ওই গ্রাম থেকে তাকে আটক করা হয়। সে সদর উপজেলার পোড়াহাটি গ্রামের মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে।

ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে সদর উপজেলার দোগাছি ইউনিয়নের কলমনখালী গ্রামে মাদক কেনাবেচা হচ্ছে এমন খবরের ভিত্তিতে সদর থানার এস আই মো : রফিকুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে নাসির উদ্দিনকে আটক করে। পরে তার দেহ তল্লাশি করে ২শ গ্রাম গাজা উদ্ধার করা হয়।

বঙ্গবন্ধুসহ শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে দোয়া মাহফিল

 বঙ্গবন্ধুসহ শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে দোয়া মাহফিল


শামিম উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি : ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ শাহাদাৎ বরণকারী সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে।


বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক অন্যতম সদস্য সুজাতুল আলম কল্লোল এর আয়োজনে এ দোয়া মাহফিলটি অনুষ্ঠিত হয়। শহরের শান্তিমোড়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন চাঁপাই নবাবগঞ্জ পৌর ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সভাপতি হাজ্বী বাবলু।


অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, একাত্তরের রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সহ-সভাপতি, সাবেক সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক আলহাজ্ব রুহুল আমিন।


উপস্থিত ছিলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট আইনজীবী এ্যাড. রবিউল ইসলাম রবু, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তাজিবুর রহমান, সাবেক ছাত্রনেতা আবু সুফিয়ান।


আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা কৃষক লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের অন্যতম সদস্য আব্দুল হাকিম, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আহবায়ক ডা. আব্দুল মতিন, সাবেক ছাত্রনেতা ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সহ-সভাপতি মু. অহিদুজ্জামান অহিদসহ পৌর আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।


৮ আগস্ট শনিবার বিকেলের অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন, সাবেক ছাত্রনেতা আল কামাল ইব্রাহিম রতন। পরে নেতাকর্মীদের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করা হয়।


আলোচনা শেষে শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন অনুষ্ঠানের আয়োজক সাবেক কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সুজাতুল আলম কল্লোল।

সাতছড়িতে জাতীয় উদ্যানে হরিণ শিকার মাথাসহ মাংস জব্দ

 সাতছড়িতে জাতীয় উদ্যানে হরিণ শিকার মাথাসহ মাংস জব্দ


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান থেকে হরিনের মাংস ও মাথা জব্দ করেছে বন বিভাগ। শিকারীর কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা উৎকোচ নিয়ে ঘটনা রফাদফার অভিযোগও উঠেছে এক বন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত কর্মকর্তা

এদিকে বন্যপ্রাণী রক্ষায় তৎপর সরকার। কিন্তু মানুষের নির্বিচার শিকারসহ বিভিন্ন কারণে অভয়াশ্রম গুলোতে দিনদিন কমছে হরিনের সংখ্যা। 


অথচ সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে এনিয়ে একাধিকবার হরিন শিকারের অভিযোগ উঠলো। এনিয়ে উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে পরিবেশ প্রেমীদের মাঝে সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতছড়ি উদ্যান এলাকার রামগঙ্গা চা বাগানের কাঠুরিয়া বিফল বড়াইকসহ কয়েকজন মায়া হরিনের মাংস ভাগ-বাটোয়ারা করছিল খবর পেয়ে সাতছড়ি রেঞ্জের বিট কর্মকর্তা সামসুদ্দিন রুমিসহ বন কর্মীরা।


বিফলের বাড়ি থেকে একটি মায়া হরিনের মাথা ও সাত কেজি মাংস জব্দ করেন। তবে এসময় কাউকে আটক করা হয়নি এদিকে গতকাল শনিবার বিকেলে কাঠুরিয়া বিফল জানান, হরিণটিকে আধমরা অবস্থায় পেয়ে আমরা বাড়ি এনে জবাই করি। তবে রাতে বন বিভাগের লোকজন এসে মাংস নিয়ে যায়।


এ ব্যাপারে মামলা দায়ের না করার জন্য আমি তাদেরকে ২০ হাজার টাকাও দিয়েছি। বনবিভাগের তেলমাছড়া বিট কর্মকর্তা মাহমুদ হোসেন জানান, হরিণের মাথা ও মাংস উদ্ধারের পর বিভাগীয় বনকর্মকর্তার নির্দেশে তা পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়েছে। এনিয়ে দেখা দিয়েছে ধু¤্রজাল। মাংস জব্দের পর ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টার অভিযোগটিও তিনি সূত্রে জানতে পেরেছেন। এদিকে ২০ হাজার টাকা নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে অভিযুক্ত কর্মকর্তা সামসুদ্দিন রুমি জানান।


এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা হয়েছে ঢাকায় হরিনের নমুনা প্রেরণ করা হয়েছে। ফরেনসিক রিপোর্ট আসলে জানা যাবে হরিণটি কিভাবে মারা গেল। চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সাতছড়ি সহ-ব্যবস্থাপনা কাউন্সিলের সভাপতি সত্যজিত রায় দাশ জানান, তিনি এ বিষয়ে কোন কিছু জানেন না তবে খোঁজ নিয়ে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আর নেই

নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আর নেই


 ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ  ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও নগরকান্দা পৌর সভার প্রথম নির্বাচিত মেয়র তৎকালীন (চেয়ারম্যান) মোয়াজ্জেম হোসেন সাহেব মিয়া আজ ঢাকায় একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন।  ইন্নালিল্লা হি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

ফরিদপুরে নগরকান্দায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ ৩০ বাড়ি ভাঙচুর

ফরিদপুরে নগরকান্দায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ ৩০ বাড়ি ভাঙচুর



ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরে নগরকান্দা আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ ৩০ বাড়ি ভাঙচুর।

এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলায় তালমা ইউনিয়ন পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটে শনিবার সকাল ৬ টা ৩০ মিনিটের দিকে উপজেলার  তালমা ইউনিয়নের তিনটি গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে,মানিকদী পিপরুল  তালেরশ্বর।  উপজেলা বিএনপির উপদেষ্টা সদস্য ফিরোজ খানের সঙ্গে স্থানীয় আওয়ামী লীগের ইউপি কমিটির সদস্য আব্দুস সামাদ মাতব্বরের লোকজনের মধ্যে এই হামলা ঘটনা ঘটে নগরকান্দা সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন সাহেব জানান পূর্বের শত্রুতার জের ধরে ফিরোজ খানের লোকজন। আব্দুস সামাদ মাতুব্বরের সমর্থকদের বাড়িতে হামলা করে, পরে পাল্টাপাল্টি ফিরোজ খানের সমর্থকদের বাড়ি ভাঙচুর করা হয়। তিনি আরো বলেন হামলার খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন,

ক্ষতিগ্রস্তরা থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নগরকান্দায় অগ্নিকান্ডে ৫ লাখ টাকার ক্ষতি

নগরকান্দায় অগ্নিকান্ডে ৫ লাখ টাকার ক্ষতি



ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার গ্রামের হালিম মাতুব্বরের বাড়িতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে, ৭ আগস্ট রাত 8 আটর সময় আগুন লাগে,

খবর পেয়ে নগরকান্দা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মোঃ আতিকুর রহমানের নেতৃত্বে নগরকান্দা ফায়ার স্টেশন নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে সফলভাবে নিবার্পণ করে।

 সরেজমিনে দেখা যায় আগুনে পুড়ে দুইটি বসতবাড়ি একটি গরুর ঘর ও একটি রান্নার ঘর পুড়ে ছাই হয়েছে।