দৌলতপুরে মাক্স ব্যবহার না করার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা

দৌলতপুরে মাক্স ব্যবহার না করার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা

 



মোঃ চঞ্চল,কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি।। কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার তারাগুনিয়া থানার মোডে পদ্মা সনো ডায়াগনস্টিক  সেন্টারের সামনে মাক্স ব্যবহার বাধ্যতামূলক অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (ভূমি) মোঃ আজগর আলী। 


এ সময় তিনি বলেন প্রতেকে মাক্স ব্যবহার করবেন এবং  অন্যকে ব্যবহার করতে উৎসাহিত করবেন নিজে সুরক্ষিত থাকবেন অন্যকে সুরক্ষিত রাখবেন। 


অভিযান শেষে চারটি মামলা সহ এক হাজার নগদ জরিমানা করেন।

জোঁড়াতালি দিয়ে চলছে কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিস

 জোঁড়াতালি দিয়ে চলছে কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিস




 কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি।।কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিসার ড. মো: মাহবুবুর রহমান তালুকদার অসুস্থ্যতার অযুহাত দেখিয়ে নিয়মিত অফিসে না আসা বা ইচ্ছামতো সময়ে অফিসে আসা সহ নানা অনিয়মের মধ্য দিয়ে জোঁড়াতালি দিয়ে চলছে কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিস। সেবা গ্রহীতাদের হয়রানি ও সেবা না পাওয়ার ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়িত। 

নানা অযুহাতে কালক্ষেপন ও অনিয়মই হয়ে উঠেছে কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিসের মূলনীতি। বার বার অফিসে গিয়েও মেলেনি দেখা কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিসারের, দেখা মেলে শুধু দরজায় ঝোঁলানো তালা। ক্ষোভ থাকলেও ক্ষ্যান্ত সবাই, কারন তিনি বড়কর্তা। করেন না কাউকে তোয়াক্কা, তাই জেলা প্রশাসকের তদন্তের নির্দেশও করেছেন অবজ্ঞা। ঘটেছে এমনও ঘটনা কুষ্টিয়ার ইবি থানার মনোহরদিয়া ইউনিয়নের রাধানগর মরানদীর জলমহল ইজারা দেওয়ার বিষয়ে জেলা সমবায় অফিসারের আপত্তির প্রেক্ষিতে ইজারা আবেদনকারী সমিতির সদস্যরা সবাই প্রকৃত মৎস্যজীবি কি না? জানতে তদন্ত কমিটি করে জেলা প্রশাসক। এই তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় জেলা মৎস্য অফিসার ড. মো: মাহবুবুর রহমান তালুকদারকে। দীর্ঘদিনেও শেষ হয় না তদন্ত। দাঁড় করান করোনা ও অসুস্থ্যতার অযুহাত। জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে দ্বিতীয় বারের মত তদন্তের নোটিশ করা হয় তাকে। তবুও শেষ হয় না তদন্ত। সর্বশেষ গত ২৪শে জুলাই ২০২০ইং তারিখে ৩য় বারের মত জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে জেলা মৎস্য কর্মকর্তাকে আহবায়ক করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সেই তদন্ত সম্পূর্ণ হলেও তদন্তের মাঠে উপস্থিত ছিলেন না কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিসার ড. মো: মাহবুবুর রহমান তালুকদার। তার স্থলে পাঠিয়েছিলেন উপজেলা মৎস্য অফিসারকে। এভাবেই দায়সারা কাজ ও অব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়েই নানা অনিয়মে চলছে কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিস।

মোস্তফা হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাএলীগ কর্তৃক বঙ্গবন্ধুর ৪৫ শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন

মোস্তফা হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাএলীগ  কর্তৃক  বঙ্গবন্ধুর ৪৫ শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন



রিয়াজুল করিম রিজভী,স্টাফ রিপোর্টার চট্টগ্রামঃমোস্তফা হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাএলীগ কর্তৃক আয়োজিত হয় হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল এবং আলোচনা সভা।


উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তা ও বিশেষ অতিথিদের বক্তব্যের মাধ্যমে ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তার পরিবারকে হত্যা কান্ডের সম্পূর্ণ ইতিহাস তুলে ধরেন। এছাড়া ও মোস্তফা হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ মহোদয় এর বক্তব্যে ফুটে উঠে অনেক ইতিহাস। উক্ত আলোচনা সভা শেষ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ  তার পরিবারের এবং সকল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য দোয়া করা হয়।


এতে সভাপতিত্ব করেন তারুণ্যের আলো সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ রাহাত ইমাম চৌধুরী।উক্ত অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন তারুণ্যের আলো সংগঠন এর যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম রবিন। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোস্তফা হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ মহোদয় জনাব মোঃ আলমগীর।প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আকবর শাহ থানা ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক ও তারুণ্যের আলো সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা  মোঃ সামির আকাশ। 


বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোস্তফা হাকিম কলেজ এর যুব রেড ক্রিসেন্ট এর যুব প্রধান মাহবুবুল আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন এবং সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন দূর্বার তারুণ্যের উপ- দপ্তর সম্পাদক রিয়াজুল করিম রিজভী।আরো উপস্থিত ছিলেন তারুণ্যের আলো সংগঠনের  প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ওমর ইসলাম ইমন, ফারহান কমিটি সদস্য রিমন,আলী, হামজা, সজীব, আরাফাত, তানভীর,ইশান এবং তারুণ্যের আলো সংগঠনের অনেক সদস্য।

স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলবে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান

স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলবে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান



কপোতাক্ষ নিউজ শিক্ষা ডেস্ক
: স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরিচালিত হবে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মুখে মাস্ক পরা, হাত পরিষ্কার, থার্মোমিটার ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হবে। আগের মতো প্রতিদিন সব বিষয়ের ক্লাস হবে না। তবে কোন বিষয়ের ক্লাস হবে তা শিক্ষক ও স্কুল ম্যানেজিং কমিটির (এসএমসি) সদস্যরা নির্ধারণ করবেন।


শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা নিশ্চিতে বিদ্যালয় খোলার আগে স্বাস্থ্য নিরাপত্তামূলক এমন ৫০টির বেশি নির্দেশনা জারি করবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এসব নির্দেশনা মেনে পাঠদান কার্যক্রম পরিচালিত হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।


মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিরাপদে রেখে বিদ্যালয়ে পাঠদান পরিচালনায় করণীয় বিষয়ক নির্দেশনা তৈরি করা হচ্ছে। বিদ্যালয় খোলার আগে ও চলাকালীন করণীয় বিষয়ক বিভিন্ন নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়া প্রতিদিন কীভাবে ক্লাস পরিচালনা হবে সে বিষয়ে দিকনির্দেশনা নির্ধারণ করে আলাদাভাবে তিনটি ক্যাটাগরিতে ৫০টির বেশি নির্দেশনা থাকবে। করোনাকালীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ইউনিসেফ, সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে দেয়া স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে এসব নির্দেশনা তৈরি করা হয়েছে।


নির্দেশনাগুলো চূড়ান্ত করতে মঙ্গলবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম হোসেনের সভাপতিত্বে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে খসড়া থেকে কিছু সংযোগ-বিয়োজন করা হয়েছে। পরবর্তী আরেকটি সভা করে এটি চূড়ান্ত করা হবে। এরপর এ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর অনুমোদনের পর তা প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করে এ সংক্রান্ত প্রচার-প্রচারণা শুরু করা হবে।


বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম আল হোসেন মঙ্গলবার সাংবাদিকদের  বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান পরিচালনা করা হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ইউনিসেফ, সিডিসি ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়া স্বাস্থ্য সুরক্ষা সংক্রান্ত বিষয়গুলো মেনে আমরা করোনা পরিস্থিতিতে বিদ্যালয় পরিচালনায় দিকনিদের্শনা তৈরি করছি। সবাইকে সেসব মেনে চলতে হবে।


তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে আগের মতো আর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালিত হবে না। বিদ্যালয় খোলার ১৫ দিন আগে থেকে স্বাস্থ্য সুরক্ষার প্রস্তুতি শুরু করা হবে। ক্লাস চলাকালীন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের করণীয় ও প্রতিদিন কীভাবে ক্লাস পরিচালনা করা হবে সেসব বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হবে।


খসড়া নির্দেশনায় দেখা গেছে, বিদ্যালয় খোলার সরকারি নির্দেশনা আসার পর ন্যূনতম ১৫ দিন আগে শিক্ষক, কর্মচারী এবং বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির (এসএমসি) সদস্যদের উপস্থিতিতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম শুরু করতে হবে। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে ক্লাস উপযোগী করে বিদ্যালয়ে পরিচ্ছন্ন করে তুলতে হবে। বিদ্যালয়ে পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। স্কুলের গেটে বা প্রবেশের স্থানে হাত ধোয়ার জন্য সাবান ও পানির ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে প্রবেশ করবে। থার্মোমিটার দিয়ে তাপমাত্রা মেপে শিক্ষার্থীদের প্রবেশ করানো হবে।


পাঠ্যক্রম পরিকল্পনায় বলা হয়েছে, আগের মতো ক্লাসে এক বেঞ্চে তিন-চারজন বসতে পারবে না, দূরত্ব বজায় রেখে পাঠদান করা হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এক বেঞ্চে দুজন শিক্ষার্থীকে বসাতে হবে। প্রাক-প্রাথমিক থেকে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের আগের মতো আর সপ্তাহে ছয় দিন ক্লাস হবে না। একটি স্তরে সপ্তাহে দুই বা তিন দিন অথবা প্রতিদিন দু-তিনটি ক্লাস নেয়া হবে। তবে ক্লাস নেয়ার ক্ষেত্রে চতুর্থ শ্রেণিকে অধিক গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে। সেই ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের গুরুত্বপূর্ণ পাঠ্যক্রম নির্বাচন করে কোন দিন কোন বিষয়ের ক্লাস নেয়া হবে তা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষক ও এসএমসির সদস্যদের নির্ধারণ করতে বলা হয়েছে।


বিদ্যালয় চলাকালীন করণীয় হিসেবে বলা হয়েছে, বিদ্যালয়ে আসতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বাধ্যতামূলক মুখে মাস্ক পরে আসতে হবে। বিদ্যালয়ে প্রবেশের সময় সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। শিক্ষার্থীরা একসঙ্গে উপচে পড়া ভিড় করে খেলাধূলা, আড্ডা-গল্প করতে পারবে না। সামাজিক দূরত্ব রেখে হাঁটাচলা করতে হবে। নোটিশ বোর্ডে বিদ্যালয় শিক্ষক, হাসপাতাল, অ্যাম্বুলেন্সসহ জরুরি যোগাযোগ নম্বর লিখে ঝুলিয়ে রাখতে হবে। কেউ অসুস্থ হয়ে গেছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সহায়তায় তাকে চিকিৎসা দিতে বলা হয়েছে।


এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিদ্যালয়) আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে অনেক অভিভাবক নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে সন্তানকে বিদ্যালয়ে পাঠাতে চাইবে না। শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আমরা ৫০টি বেশি দিকনির্দেশনামূলক গাইডলাইন তৈরি করেছি। বিদ্যালয় খোলার ঘোষণা এলে তা বাস্তবায়ন শুরু হবে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান পরিচালনা করা হবে।


তিনি বলেন, বিদ্যালয়ের জন্য তৈরি দিকনির্দেশনাগুলো সবার কাছে পৌঁছে দিতে ফেসবুক, অনলাইন, ওয়েবসাইট, গণমাধ্যমসহ সকল মাধ্যমে প্রচারণা চালানো হবে। এতে করে অভিভাবকরা তাদের সন্তানকে বিদ্যালয়ে পাঠাতে আগ্রহী হবেন। করোনাকালীন বাৎসরিক উন্নয়ন বাবদ অর্থ দিয়ে প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কিনতে নির্দেশ দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।


মাধবপুরে পূর্ব শক্রতার জের ধরে হামলা মা মেয়ে সহ আহত ৩, স্বর্ণালংকার ও টাকা লুট!

মাধবপুরে পূর্ব শক্রতার জের ধরে হামলা মা মেয়ে সহ আহত ৩, স্বর্ণালংকার ও টাকা লুট!



লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃহবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার ছাতিয়াইন গ্রামে পূর্ব শক্রতার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় মা, মেয়ে সহ ৩ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় মেয়ের বিয়ের জন্য ঘরে রাখা  নগদ টাকা ও স্বণাংকার লুট করে নিয়ে যায় প্রতিপক্ষের লোকজন মঙ্গলবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। 


ছাতিয়াইন গ্রামের সমসু মিয়ার স্ত্রী আহত সাবেনা আক্তার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জানান একই গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য  (মেম্বার) ফকির চাঁন মিয়ার ছেলে সুলতান মিয়া ও তার ভাতিজা ইসমাইল মিয়ার লোকজন মঙ্গলবার বিকেলে পূর্ব শক্রতার জের ধরে তাদের বাড়িতে হামলা করে তাকে সহ তার দুই মেয়ে সুমা আক্তার (১৯) ও রুমা আক্তার (২০) কে পিটিয়ে আহত করে।


হামলাকারীরা সুমা বিয়ের জন্য ঘরে রাখা ১ লাখ টাকা ও ২ ভরি স্বর্ণ লুট করে নিয়ে গেছে। সাবেনা আক্তারের ভাই ফেরু মিয়া জানান,  আগামী শুক্রবার আমার ভাগনি সুমার বিয়ের তারিখ । সে জন্য ব্র্যাক ব্যাংক রতনপুর শাখা থেকে নগদ এক লাখ টাকা নিয়ে ঘরে রাখা হয়। প্রতিপক্ষের লোকজন মঙ্গলবার বিকেলে তার বোন সাবেনা আক্তারের বাড়িতে।


হামলা করে বিয়ের জন্য ব্যাংক থেকে উত্তোলন করা এক লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে গেছে। বিষয়টি ছাতিয়াইন পুলিশ ফাঁড়িতে জানানো হয়েছে। ছাতিয়াইন পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) কামরুল ইসলামের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান সংঘর্ষের খবর পেয়ে দ্রত পুলিশ পাঠনো হয়েছে।


যারা আহত হয়েছে তাদের কে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। টাকা ও স্বর্ণলংকার লুট করেছে কিনা বিষয়টি তদন্ত করে বলতে হবে। মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোঃ ইকবাল হোসেন জানান অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাশাপোল ইউনিয়ন আ'লীগ,যুবলীগ,ছাত্র লীগের উদ্যোগে শোক দিবস উদযাপন

পাশাপোল ইউনিয়ন আ'লীগ,যুবলীগ,ছাত্র লীগের উদ্যোগে শোক দিবস উদযাপন



নিউজ ডেস্কঃ পাশাপোল ইউনিয়ন আ'লীগ,যুবলীগ,ছাত্র লীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন উদযাপন। যশোর জেলার চৌগাছা উপজেলার ২ নং পাশাপোল ইউনিয়ন যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে পাশাপোল বাজারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৪৫তম  মৃত্যু বার্ষিকী পালন করা হয়।এ সময় পাশাপোল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মোঃ সবুজ হোসেন সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সোহাগ হোসেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ি মোঃ জনি যুবলীগ নেতা মোঃ আমিরুল ইসলাম, আওয়ামী নেতা আঃ সামাদ সন্তোস, সহ  যুবলীগ নেতা মোঃ নাজমুল হুসাইন, মোঃ কবির হোসেন, ডাঃ মোঃ রুহুল আমিন   ডাঃ মোঃ ছোটন ছাত্রলীগ নেতা পারভেজ,রায়হান,যুবলীগ নেতা মোঃ উজ্জল,মোঃ হাফিজুর  ছাত্রলীগ নেতা মোঃ মাহামুদুর রহমান সহ ইউনিয়ন ছাত্রলীগ যুবলীগের নেতাকর্মীরা। 

এসময় ১৫ ই আগস্টে বঙ্গবন্ধু সহ শাহাদাৎ বরণ কারী সকল শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোওয়া করা হয় এবং দুস্তদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়। 


ফলোআপঃমহেশপুরে শুভ ক্লিনিকে ডাঃ সোহেল রানার ভুল সিজারে প্রাণ গেলো প্রসূতি মায়ের

ফলোআপঃমহেশপুরে  শুভ ক্লিনিকে ডাঃ সোহেল রানার ভুল সিজারে প্রাণ গেলো প্রসূতি মায়ের

    

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃআবারও সেই নেশা গ্রস্ত ডাক্তারের ভূল সিজার অপারেশনের কারনে রিনা খাতুন (৩২) নামের এক প্রসুতি মায়ের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার(১৮ই আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে ঝিনাইদহের মহেশপুর শুভ ক্লিনিক এণ্ড প্রাইভেট হাসপাতালে সিজার অপারেশন করার সময় টেবিলেই তার মৃত্যু হয়।

মৃত রিনা খাতুন মহেশপুর উপজেলার হাবাশপুর স্কুল পাড়া গ্রামের সামাউল ইসলামের স্ত্রী। এদিকে ক্লিনিক মালিক সুভাষ কুমার তার শাঙ্গু পাঙ্গু নিয়ে রোগীর আত্মীয় জনদের সাথে দফা রফায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।

মৃত রিনা খাতুনের স্বামী সামাউল ইসলাম জানান,ক্লিনিক মালিক আমার বৌ কে মেরে ফেলেছে। আমি তার বিচার চাই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পাতিবিলা গ্রামের কয়েকজন জানান, ভাড়া করা নেশাগ্রস্ত ডাক্তার সোহেল রানাকে দিয়ে শুভ ক্লিনিক এণ্ড প্রাইভেট হাসপাতালের মালিক সুভাষ কুমার প্রায় দিনে ও রাতে বিভিন্ন ধরনের অপারেশন করে আসছিলো। তারা আরো জানান, ঝাড়ুদার হয়েছে নার্স আর সুইপার যদি আয়া হয় আর এক জন মাতাল ডাক্তার দিয়ে যদি অপারেশন করানো হয় তাহলে তো রোগী মারা যাবেই।

মাত্র ৮ দিন পুর্বে নেপামোড়ের মা ও শিশু ক্লিনিক ও একই এলাকার একতা ক্লিনিকে ভুল সিজার অপারেশন করার সময় নেশাগ্রস্ত ডাক্তার সোহেল রানার হাতে সীমান্ত এলাকার জিনজিরা পাড়ার মরিয়ম খাতুন ও সালমা নামের দু’ প্রসুতি মায়ের মৃত্যু হয়। একের পর এক প্রসুতি মায়েদের মৃত্যুর ঘটনা ঘটলেও স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের যেন ঘুম ভাংছেনা।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডাক্তার আনঞ্জুমানআরা খাতুনের সাথে তার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন কেটে দিয়ে বন্ধ করে রাখেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাশ্বতী শীল জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। আর এ সব ক্লিনিক গুলো বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ। তিনি আরো জানান আমি তারাতারিই ক্লিনিক গুলোতে অভিযান চালাবো।

সমাজ কল্যাণ পরিষদ চতুল ইউপি শাখার ঈদ পুনর্মিলনী

 সমাজ কল্যাণ পরিষদ চতুল ইউপি শাখার ঈদ পুনর্মিলনী



আদিল আহমদ কানাইঘাট উপজেলা প্রতিনিধিঃকানাইঘাট উপজেলা সমাজ কল্যাণ পরিষদ এর ৫ নং ইউ,পি র ঈদ পুর্নমিলনী আজ মঙ্গলবার  স্থানীয় ইউনিয়ন অফিসে  অনুষ্ঠিত হয় 


শাখা সভাপতি শিমুল শর্মার সভাপতিত্বে ও

সাধারণ সম্পাদক শাব্বির আহমদের পরিচালনায় এতে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিষদ  কার্যনির্বাহ সদস্য এম এ আদিল আহমদ।


উপস্থিত ছিলেন সালমান, সারওয়ার, মুস্তাফিজ, মাহফুজ, সহ আরো অনেক

মোংলায় পুষ্টি উন্নয়নে উপজেলা কিশোর-কিশোরী ফোরাম গঠন

মোংলায় পুষ্টি উন্নয়নে উপজেলা কিশোর-কিশোরী ফোরাম গঠন




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃপুষ্টি উন্নয়নে অংশগ্রহণমূলক সমন্বিত প্রকল্পএর আওতায় রূপান্তরএর আয়োজনে ১৮ আগস্ট মঙ্গলবার সকালে মোংলা উপজেলা অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে উপজেলা পর্যায়ে কিশোর-কিশোরী ফোরাম গঠন সভা অনুষ্ঠিত হয়।


মঙ্গলবার সকাল ১১টায় কিশোর-কিশোরী ফোরাম গঠন সভায় সভাপতি এবং প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নূর আলম শেখ ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এস এ আনোয়ার উল কুদ্দুস। এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চাঁদপাই মেছেরশাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বদেশ মন্ডল, রূপান্তরের ক্রেইন প্রকল্পের কো-অর্ডিনেটর খালেদা আক্তার মুন, সিএস্ও শরিফুল বাসার, বিপাশা রায়, জেজেএসএর তরুন বড়–য়া প্রমূখ।সবাই দেব দৃষ্টি, আর নয় অপুষ্টিচ্ শ্লোগানে কিশোর-কিশোরী ফোরাম গঠন সভায় তিন বছরের জন্য রিয়াজকে সভাপতি এবং তানভীরকে সাধারণ সম্পাদক করে মোংলা উপজেলা কিশোর-কিশোরী ফোরাম গঠন করা হয়।##

সিরাজগঞ্জে ৭ টি চোরাই মটরসাকেল সহ এক জন আটক

 সিরাজগঞ্জে ৭ টি চোরাই মটরসাকেল সহ এক জন আটক


মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার চরাঞ্চলে অভিযান চালিয়ে ৭টি চোরাই মোটরসাইকেলসহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আলম (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে ওই চরাঞ্চলের গোটিয়ার চর গ্রামের মৃত বাহার আলীর ছেলে।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার এসআই মেহেদী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে জানান, বেশ কিছুদিন ধরে এলাকার বিভিন্ন স্থানে অভিনব কায়দায় মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটছে। এমন চুরির ঘটনা প্রতিরোধ ও চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধারে পুলিশ সুপার হাসিবুল আলম বিপিএম নির্দেশ দেন। এ নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে ওসি হাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার প্রায় দিনভর যমুনা নদীর চরাঞ্চলের মেছড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে বিশেষ অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় উল্লেখিত চোরাই মটোর সাইকেল উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আলমকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে ব্যাপক পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদ চলছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ঝিনাইদহে করোনা আক্রান্ত ও করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত ৪২তম মৃতদেহ দাফন

 ঝিনাইদহে করোনা আক্রান্ত ও করোনা উপসর্গ নিয়ে   মৃত ৪২তম মৃতদেহ দাফন


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃকরোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত ৪২তম মৃতদেহের দাফন কাফন সম্পন্ন করলো ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশন। ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথের নির্দেশনা নিয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক আব্দুল হামিদ খান এই মহতি কাজটি করে যাচ্ছেন। 

১৮আগষ্ট মঙ্গলবার   ঝিনাইদহে করোনা উপসর্গ নিয়ে দু’জন মারা গেছেন। সদর হাসপাতালের করোনা সাসপেক্টটেড ইউনিটে তাদের মৃত্যু হয়। এরা হলেন, হরিণাকুন্ডু উপজেলার মাঠ আন্দুলিয়া গ্রামের ৭৫ বছর বয়সের মোফাজ্জেল হোসেন ও যশোর ভায়না গ্রামের ৪৭ বছর বয়সের মোহন দাস। তারা দু’জনই সর্দ্দি, কাশি, জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের করোনা সাসপেক্টটেড ইউনিটে ভর্তি হয়েছিলেন। করোনা উপসর্গ থাকায় তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। 

ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশন’র উপপরিচালক মোঃ আব্দুল হামিদ খানের তত্ত্বাবধানে হরিণাকুন্ডু উপজেলা নিবার্হী অফিসার ও পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় ফিল্ড সুপারভাইজার আবু হানিফের নেতৃত্বে লাশ দাফন কমিটির মাধ্যমে স্থানীয় গোরস্থানে দুপুর ১:৩০ মিনিটে মরহুম মোফাজ্জেল হোসেনের মৃতদেহ দাফন করা হয়।

বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে নাভারণ ইউনিয়নে শোক সভা অনুষ্ঠিত

বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে  নাভারণ ইউনিয়নে শোক সভা অনুষ্ঠিত




মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত, ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৫ তম শাহাদাত বা‌র্ষিকী উপল‌ক্ষে মঙ্গলবার বিকেলে ঝিকরগাছার নাভারন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ স্থানীয় হা‌ড়িয়া নিমতলা মো‌ড়ে শোকসভার আ‌য়োজন ক‌রেছে। নাভারন ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলী‌গের সভাপ‌তি ও চেয়ারম্যান শাহাজান আলীর সভাপ‌তি‌ত্বে শোকসভায় প্রধান অ‌তি‌থি হিসা‌বে উপ‌স্থিত ছি‌লেন ঝিকরগাছা উপ‌জেলা চেয়ারম্যান ম‌নিরুল ইসলাম। 


সম্মা‌নিত অ‌তি‌থি হিসা‌বে উপ‌স্থিত ছি‌লেন, য‌শোর জেলা যুবলীগ এর সহ সভাপ‌তি আজাহার আলী, উপ‌জেলা ছাত্রলী‌গের সা‌বেক সভাপ‌তি ও যুবলী‌গ নেতা র‌ফিকুল ইসলাম বাপ্পী, সা‌বেক সাধারন সম্পাদক ও যুবলীগ নেতা শামীম রেজা, নাভারন ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলী‌গের সাধারন সম্পাদক প্রভাষক  র‌ফিকুল ইসলাম বু‌লি , ঝিকরগাছা  ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ এর যুগ্ম সম্পাদক খাইরুল হুদা রা‌সেল, ঝিকরগাছা প্রেসক্লা‌বের সাধারন সম্পাদক ইমরান রশীদ, নাভারন ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা মোস‌লেম আলী, নুর ইসলাম, আব্দুল হা‌কিম, আব্দুর র‌হিম, লাল্টু হো‌সেন, মেম্বর সাইফুল ইসলাম, আব্দুল মা‌জেদ, লাল মিয়া, যুবলীগ নেতা ফারুক আহ‌মেদ  মুকুল, ফারুক হো‌সেন, গদখালী  ইউ‌নিয়ন  ছাত্রলী‌গের সভাপ‌তি ও মেম্বর র‌ফিকুল ইসলাম, নির্বাস‌খোলা ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা র‌ফিকুল ইসলাম, আব্দুস সাত্তার, ঝিকরগাছা উপ‌জেলা ছাত্রলীগ নেতা আ‌রিফ হো‌সেন, ত‌রিকুল ইসলাম, র‌নি, মিঠু, রাজ প্রমূখ।

আত্নবিলাপ মোঃ আসাদুজ্জামান।

 আত্নবিলাপ  মোঃ আসাদুজ্জামান।


আমি চিৎকার করবো,!!!

আমি চিৎকার করবো,এই ঘুমন্ত পৃথিবীটা না জেগে ওঠা অবধি, 

আমি চিৎকার করবো!!

ও-ই সব ঘুমন্ত বিবেকের বিবেককে জাগানোর জন্য,

আমি চিৎকার করবো!!

এই অন্ধ সমাজের অন্ধত্ব ঘুচানোর জন্য,

যে সমাজে মেয়ে ধর্ষিত হয় বাবার সামনে,

তার বিচারের দাবি তুলে,

আমি চিৎকার করবো!!

অবহেলিত এক মায়ের জন্য,

রাস্তায় পঁচে যাওয়া মানবতার জন্য,

আমি চিৎকার করবো!!

পোকায় খাওয়া বিবেকের জন্য, 

ডাস্টবিনে পড়ে থাকা ভবিষ্যতের আত্নচিৎকার শুনানোর জন্য, 

আমি চিৎকার করবো!!

ময়লার স্তুপে চাপা পড়া স্বপ্ন গুলোর

স্বপ্ন বাঁচানোর জন্য,

আমি চিৎকার করবো!!

যে টোকাই রাস্তায় রাস্তায় স্বপ্ন কুড়াই, তার জন্য। 

আমি চিৎকার করবো!!

মর্গের ওপার থেকে আর্তনাদ আসে, -"আমরাও বাঁচতে চেয়েছিলাম"।।

লাশের মিছিল নিয়ে ওদের বাচার দাবি নিয়ে,

আমি চিৎকার করবো!!

আমার  চিৎকারে এই বধির সমাজের মগজ কানের ছিদ্র দিয়ে গড়িয়ে পড়বে, 

তবুও আমি চিৎকার করবো!!

আশাশুনিতে উপজেলা আ'লীগের দপ্তর সম্পাদক জগদিস চন্দ্র সানার পিতার শেষকৃত্য সম্পন্ন

আশাশুনিতে উপজেলা আ'লীগের দপ্তর সম্পাদক জগদিস চন্দ্র সানার পিতার শেষকৃত্য সম্পন্ন


আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধি   : আশাশুনি উপজেলা আ'লীগের দপ্তর সম্পাদক জগদিস চন্দ্র সানার পিতা উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের বামনডাঙ্গা গ্রামের হিমাংশু চন্দ্র সানার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে বামনডাঙ্গা মৎস্য সেট সংলগ্ন শ্মশানে তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়।


শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে আশাশুনি উপজেলা আ'লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম,  উপজেলা আ'লীগের সাধারণ সম্পাদক শম্ভুজিত মন্ডল, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ঢালী মোঃ সামছুল আলম, পাইকগাছা উপজেলার চাঁদখালী ইউনিয়নের আ'লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ মনসুর গাজী, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রনজিত কুমার বৈদ্য, আওয়ামী লীগ নেতা এস এম ওমর সাকি পলাশ, আশাশুনি রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, প্রচার সম্পাদক বি এম আলাউদ্দিন আ'লীগ নেতা সাজ্জাদ হোসেন, আশাশুনি উপজেলা, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।


উল্লেখ্য, হিমাংশু চন্দ্র সানা (১০৫) বার্ধক্যজনিত কারণে সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বামনডাঙ্গাস্থ নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃতকালে তিনি স্ত্রী, ৩পুত্র সন্তানসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে প্রাণ গেল এক যুবকের

 নওগাঁর আত্রাইয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে প্রাণ গেল এক যুবকের


মোঃ ফিরোজ হোসাইন রাজশাহী ব্যুরোঃনওগাঁর আত্রাইয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মোঃ আলিফ (২২) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত আলিফ চৌউরবাড়ী গ্রামের মোতালেব হোসেনের ছেলে। তিনি বালুর ব্যবসা করতেন।


মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।


পরিবার জানায়, উপজেলার আহসানগঞ্জ ইউনিয়নে চৌউড়বাড়ী থেকে বালু নামিয়ে ফেরার পথে বেওয়ার ডিপ নামক স্থানে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন ঝুলে থাকায় অসতর্কতার করণে তারে ঝুলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে পানিতে পরে যান আলিফ। অনেক খোঁজাখুজির পর তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকি ৎসক মৃত ঘোষণা করেন।


এব্যপারে আত্রাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মোসলেম উদ্দিন সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিলের মধ্যে ঝুলে থাকা তারের সাথে স্পৃষ্ট হয়ে পানিতে পরে তার মৃত্যু হয়েছে।

ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের জন্য সামগ্রী বিতরণে লিপি ওসমান

 ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের জন্য সামগ্রী বিতরণে লিপি ওসমান


সিপন রিপোর্টার নারায়ণগঞ্জঃজেলা প্রশাসক মহোদয়ের সম্মেলনকক্ষে এক সংবর্ধনা দেয়া অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক ও ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন। 


সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় মহিলা সংস্থা,নারায়ণগঞ্জ এর চেয়ারম্যান সালমা ওসমান লিপি।


সালমা ওসমান লিপি ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের জন্য বেড ও অন্যান্য সামগ্রী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেন।


খবির আহমেদ ও ফারুক বিন ইউসুফ পাপ্পু,য খোরশেদ আলম নাসিক কিছু উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়। 


জেলা প্রশাসক মোঃ জসিম উদ্দিন সম্প্রতি করোনায় মারা যাওয়া এক মহিলার এতিম শিশু বাচ্চার হাতে ২০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন

মাধবপুরে ৫টি চা বাগান এখন আর্থিক সংকটে

মাধবপুরে ৫টি চা বাগান এখন আর্থিক সংকটে


লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃহবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার লস্করপুর ভ্যালির পাঁচটি চা বাগান আর্থিক সংকটের মধ্যে পড়েছে। গত বছরের দরপতন, চলতি বছরে করোনার সংক্রমণ ও লকডাউনের কারণে তিন-চার মাস নিলাম বন্ধ ছিল। ফলে সুরমা, তেলিয়াপাড়া, জগদীশপুর, নয়াপাড়া ও বৈকুণ্ঠপুর চা বাগান সংকটে পড়েছে। নিলামে বিক্রি না হওয়ায় গুদামে প্রচুর চা পাতা পড়ে রয়েছে।


বাগান মালিকরা ব্যাংক ঋণ ও ধার-দেনা করে শ্রমিকদের রেশন তলব ও বাগানের অন্যান্য ব্যয় চালিয়ে আসছেন। বাগান ব্যবস্থাপকরা বলেন, এ বছর করোনাভাইরাস ও লকডাউনের কারণে তারা বড় ধরনের আর্থিক সংকটের মধ্যে পড়েছে। নয়াপাড়া চা বাগানের ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম বলেন, এখন চা পাতা বিক্রি হচ্ছে না। গত তিন-চার মাস লকডাউন থাকার কারণে দেশের অভ্যন্তরে চা স্টল বন্ধ থাকায় চায়ের চাহিদা কমে যায়। এ কারণে নিলামে ক্রেতারা চা কিনতে আগ্রহী হয়নি।


তিনি বলেন, এক কেজি চা পাতা উৎপাদন করতে খরচ পড়ে ২০০ টাকার ওপরে। কিন্তু নিলামে বিক্রি হচ্ছে ১৫০ থেকে ২০০ টাকায়। বৈকুণ্ঠপুর চা বাগানের ব্যবস্থাপক তছলিম উদ্দিন জানান, গত বছর অবৈধ পথে ভারত থেকে নিম্নমানের চা পাতা আসার কারণে দেশীয় চা বিক্রি হয়নি। এ বছর করোনার কারণে দেশের অভ্যন্তরীণ বাজারে চায়ের চাহিদা কমে গেছে। এখন প্রতিটি চা বাগানে প্রচুর পরিমাণে বিক্রি উপযোগী চা পাতা মজুদ রয়েছে। সরকার সহজ শর্তে ঋণ না দিলে বাগানগুলো অচিরেই বন্ধ হয়ে যাবে।


জগদীশপুর চা বাগানের ব্যবস্থাপক বিদ্যুৎ কুমার রায় জানান, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ভারত থেকে চা পাতা আসার কারণে বাগানগুলো লোকসানের মধ্যে পড়েছে। এ বছর করোনার কারণে বাগানগুলো ফের লোকসানের মধ্যে পড়বে। সুরমা চা বাগানের ব্যবস্থাপক আবুল কাশেম জানান, সরকার যদি জরুরীভাবে চা শিল্পকে প্রণোদনা কিংবা সহজ শর্তে ঋণ না দেয় তাহলে পাট ও চামড়ার মতো চা শিল্প বন্ধ হয়ে যাবে। চা বাগান বন্ধ হয়ে গেলে কয়েক লাখ শ্রমিক কর্মহীন হয়ে পড়বে।

দিনাজপুরে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপন কর্মসুচীর উদ্বোধন

 দিনাজপুরে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপন কর্মসুচীর উদ্বোধন


মামুনুর রশিদ। দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ও জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির সার্বিক সহযোগিতায় ও তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গৃহীত কর্মসুচীর অংশ হিসেবে ১৮ আগষ্ট মঙ্গলবার দিনাজপুর সদর উপজেলা ৭নং উথরাইল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসুচীর উদ্বোধন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ তানভীর ইসলাম রাহুল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আহসানুজ্জামান চঞ্চল, যুগ্ম আহবায়ক আতিকুল ইসলাম আতিকসহ ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। এ সময় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখু মুজিবুর রহমানের আদর্শে গড়া ছাত্রলীগ দেশ ও জাতির কল্যানে কাজ করে।  ছাত্রলীগ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে কোন দুর্যোগ মোকাবেলায় সব সময় প্রস্তুত রয়েছে। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ছাত্রলীগ কঠোর অবস্থানে রয়েছে। সুন্দরভাবে বাচতে হলে আমাদের সকলকে গাছ লাগাতে হবে। ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপন কর্মসুচী দিনাজপুর শহরের ১২ টি ওয়ার্ড ও ১০ ইউনিয়নে অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।

মোংলা বন্দরে তিন নম্বর সংকতে বলবৎ, টানা বৃষ্টিতে পণ্য ওঠানামার কাজ বন্ধ

 মোংলা বন্দরে তিন নম্বর সংকতে বলবৎ, টানা বৃষ্টিতে পণ্য ওঠানামার কাজ বন্ধ


 মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা:  বঙ্গোপসাগরের লঘুচাপটি মৌসুমী বায়ুর সাথে মিশে বাংলাদেশের উপর সক্রিয় ও উত্তর বঙ্গোপসাগরে প্রবল অবস্থায় বিরাজ করছে। ফলে মঙ্গলবারও মোংলা সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বলবৎ রয়েছে। এর প্রভাবে সোমবার দিবাগত রাত থেকে শুরু হওয়া টানা বৃষ্টিপাত মঙ্গলবার দিনভর অব্যাহত রয়েছে। রাত থেকে শুরু হওয়া টানা বৃষ্টিপাত সকালেও অব্যাহত থাকার কারণে মোংলা বন্দরে অবস্থানরত সার ও ক্লিংকারসহ বিভিন্ন পণ্যবাহী ১৫টি বিদেশী বাণিজ্যিক জাহাজের মালামাল ওঠানামার কাজ সম্পূর্ন বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছেন বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাষ্টার কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন। তিনি আরো বলেন, বষার্য় প্রতিদিনই কার্যক্রম বিঘ্নিত হচ্ছে। এরমধ্যে যখন বৃষ্টি কমছে তখন কাজ শুরু হচ্ছে, আবার যখন বাড়ছে তখন বন্ধ থাকছে। তবে স্বাভাবিক রয়েছে বন্দর জেটির অভ্যন্তরের কার্যক্রম। 


এদিকে বৃষ্টির পানিতে পৌর শহর ও শহরতলীর নিম্নাঞ্চলে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া এখানকার বেশ কিছু সংখ্যক চিংড়ি ঘের তলিয়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। উপজেলা মৎস্য কর্মকতার্ এজেডএম তৌহিদুজ্জামান বলেন, সকাল থেকে বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ খবর নিয়ে তালিকা নির্ণয় করা হচ্ছে। দুপুরের দিকে সঠিক সংখ্যা জানানো সম্ভব হবে।


টানা বৃষ্টিপাতে এখানকার স্বাভাবিক জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে খেটে খাওয়া দিন মজুর ও রিক্সা-ভ্যান চালকেরা। 


তবে এমন টানা বৃষ্টিপাত মঙ্গলবার দিনভর অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। #

চৌগাছায় জনতার হাতে মাদক ব্যবসায়ী আটক

 চৌগাছায় জনতার হাতে মাদক ব্যবসায়ী আটক


মোরশেদ আলম,যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি:যশোর চৌগাছা থানাধিন দুলালপুর গ্রামে১৭ আগস্ট সোমবার ওহাবের চায়ের দোকানের সামনে স্থানীয় জনসাধারণ ১৩ বোতল ফেন্সিডিল এবং ১কেজি ৫০০গ্রাম গাঁজাসহ একজন কে আটক করে।আটক কৃত ব্যক্তির নাম  সবুজ হোসেন (২২)  আটককৃত আসামী চৌগাছা উপজেলার দুলালপুর গ্রামের সাহারতের ছেলে৷ স্থানীয় জনতা তাকে  হাতেনাতে আটক করে চৌগাছা থানা পুলিশকে সংবাদ দেয়।

থানা সূত্রে জানা যায়, সংবাদ পেয়ে, চৌগাছা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং আসামিকে গ্রেপ্তার করে এবং তার কাছে থাকা ফেনসিডিল ও গাজা উদ্ধার করে। পরে চৌগাছা থানা পুলিশ সাধারন জনতাকে ধন্যবাদ জানিয়ে যশোর জেলা পুলিশ ফেসবুক প্রেইজে বলেন, প্রত্যেকটি এলাকার জনসাধারণ যদি এভাবে সচেতন হয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন তাহলে চৌগাছার কোথাও মাদক ব্যবসায়ীরা মাদক পাচার ও ব্যবসার সুযোগ পাবেনা। এভাবে প্রত্যেকটি গ্রামে যদি মাদকের বিরুদ্ধে স্থানীয় জনসাধারণকে প্রতিরোধ গড়ে তোলে অবশ্যই মাদকমুক্ত চৌগাছা গড়া সম্ভব।

এ ব্যাপারে চৌগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রিফাত খান রাজিব বলেন, আসামী সবুজ হোসেনকে মাদকসহ সাধারণ জনতা হাতেনাতে আটক করে পুলিশকে সংবাদ দেয় ৷ সেই সংবাদের ভিত্তিতে ঘটনাস্থলে যেয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয় ৷ এঘটনায় তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে ৷ যার মামলা নং ১২ ৷ তিনি আরও বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যহত থাকবে ৷


মহেশপুরে কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী বিশা ফেন্সিডিল সহ আটক

 মহেশপুরে কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী বিশা ফেন্সিডিল সহ  আটক

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি:নিজস্ব গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ঝিনাইদহের মহেশপুর১৮ আগষ্ট মঙ্গলবার  ব্যাটালিয়ন (৫৮ বিজিবি)’র অধীন যাদবপুর বিওপির হাবিলদার মো: আব্দুর রহমানের নেতৃত্বে সীমান্তে এলাকায় অভিযন চালায়। সেসময় সীমান্তের শূন্য লাইন হতে আনুমানিক ১০০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে মহেশপুর উপজেলার গোপালপুর গ্রামের জনৈক আলমের পুকুর পাড় হতে কুখ্যাত মাদক ও ফেন্সিডিল  ব্যবসায়ী মোঃ বিশা মোল্লাকে ১০০ বোতল  ফেন্সিডিল সহ আটক করে। বিশা মোল্লা  মহেশপুর উপজেলার মান্দারবাড়িয়া গ্রামের কাশেম মোল্লার ছেলে। 

এছাড়া কানাইডাংগা গ্রামের মাঠের মধ্যে মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে মালিকবিহীন অবস্থায় ১০০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়।

ফুলপুরে মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে পড়ে ৮জন নিহত

 ফুলপুরে মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে পড়ে ৮জন নিহত




স্টাফ রিপোর্টার : আর.জে মিজানুর রহমান ইমন :


ময়মনসিংহের ফুলপুরে মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে পড়ে শিশু সহ ৮জন নিহত হয়েছেন এবং দুইজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে । বাকিদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে ।  ঘটনাটি ঘটেছে, ১৮ই আগষ্ট মঙ্গলবার সকাল ৭:টার দিকে । নিহতদের বাড়ি ময়মনসিংহের ভালুকায় । ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন, ময়মনসিংহ ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক  মোঃ আবুল হোসেন । 


পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মাইক্রোবাসটি ময়মনসিংহের ভালুকা থেকে শেরপুর নালিতাবাড়ী উপজেলা যাওয়ার পথে ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুরে বাশাটি নামক এলাকা স্থানে পৌছাতেই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরের পড়ে যায় । মাইক্রোবাসে মোট ১৪জন যাত্রী ছিলেনতারাই একই পরিবারের সদস্য বলে জানা গেছে । 


তবে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে ড্রাইভার সম্ভবত চোখে ঘুম নিয়ে গাড়ি চালাচ্ছিলেন ।

মাগুরায় পূজা উদযাপন পরিষদের নেতার ভাইকে হামলার প্রতিবাদে দিনাজপুরে মানববন্ধন

মাগুরায় পূজা উদযাপন পরিষদের নেতার ভাইকে হামলার প্রতিবাদে দিনাজপুরে মানববন্ধন


মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি ঃ বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল কুমার চ্যাটার্জীর সহোদয় বাবুল চ্যাটারর্জীর উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে দিনাজপুরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত।

আজ মঙ্গলবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার আয়োজনে উক্ত মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়। এসময় পরিষদের নেতারা বলেন, মাগুড়ায় জেলার বাসিন্দা বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল কুমার চ্যাটার্জীর ভাই বাবুল চ্যাটারর্জীর জমি জবর দখলসহ তার উপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়। স্থানীয় জঙ্গী সংগঠনের এক সক্রিয় নেতা মোস্তাফিজুর রহমান ও তার সহযোগীরা এই হামলা চালায়। তাই তাদের আইনের আওতায় এনে দ্রুত শাস্তির দাবীতে জানান তারা। এসময় উপস্থিত ছিলেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি সুনীল চক্রবর্তী, সাধারন সম্পাদক রতন সিং, পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার প্রমূখ।

উল্লেখ্য, গত ১৩ আগষ্ট একদল ভূমিদস্যু মাগুরা জেলার মহম্মদপুরে সংখ্যালঘুদের জমি জমা জোর পূর্বক দখলের চেষ্টা করে। এসময় দুস্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে বাবুল চ্যাটার্জি ও সুকান্ত চক্রবর্তীকে মারধর করে গুরুতর আহত করে সন্ত্রাসীরা। পরে এ ঘটনায় মহম্মদপুর থানায় পরিবারের পক্ষ থেকে এই মামলা দায়ের করে।

সাতক্ষীরায় বৃদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আটক

 সাতক্ষীরায় বৃদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আটক



আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরায় ছেলেকে গণপিটুনির কবল থেকে উদ্ধার করতে গিয়ে এক পিতার করুণ মৃত্যু হয়েছে। 

অভিযোগ উঠেছে, ওই বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। 


এ ঘটনায় তালা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সরদার মশিয়ার রহমানকে আটক করেছে পুলিশ।


সোমবার রাত ১১টার দিকে তালা উপজেলা সদরের নলবুনিয়া গ্রামের মৃত্যু আইজুল নিকারীর ছেলে নিহত লুৎফর নিকারীর ভাতিজা জেয়ালা নলতা গ্রামের, রুহুল আমিন নিকারী জানান, রাতে নলবুনিয়া বিলের সরকারি খালে তার চাচাতো ভাই সেলিম নিকারী মাছ ধরছিল। ওই খালের সঙ্গে তালা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সরদার মশিয়ার রহমানের মাছের ঘের অবস্থিত।

সেলিম মাছ ধরার সময় মশিয়ারের সহযোগী রনি মাছ চুরির অভিযোগে তাকে আটক করে। এরপর সরদার মশিয়ার রহমান ঘটনাস্থলে পৌঁছে রনি ও তার অপর সহযোগী তুহিন শেখকে নিয়ে সেলিমকে মারপিট করে।


মারপিটের ঘটনাশুনে সেলিম নিকারীর বাবা লুৎফর নিকারী ঘটনাস্থলে আসে,এসময়  সেখানে যাওয়া মাত্রই সরদার মশিয়ার, তুহিন ও রনি একত্রে তাকেও মারপিট করে। 

পরে গ্রামবাসী গিয়ে লুৎফর রহমানকে মৃত অবস্থায় উদ্ধা করে।

তার ছেলে সেলিমকেও তার পাশে অচেতন অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়।


শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আহত সেলিম নিকারী বর্তমানে তালা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার কানের পর্দা ফেঁটে গেছে।


স্থানীয়রা ওই রাতেই ক্ষোভের বসে,পুলিশের জরুরী সেবা সার্ভিস ৯৯৯ ফোন দেয়। 

পুলিশ এসে তালা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সরদার মশিয়ারকে আটক করে।


অপরদিকে, এ হত্যাকান্ডের বিচার দাবি করে আজ মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) সকালে লুৎফর রহমানের মরদেহ নিয়ে তালা উপশহরে মিছিল করে থানা প্রাঙ্গনে, গ্রামবাসী হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে স্লোগান দেয়।


এব্যাপারে তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সরদার মশিয়ারকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রংপুরে করোনায় নতুন দু‘জনসহ এ পর্যন্ত ৫০ জনের মৃত্যু

রংপুরে করোনায় নতুন দু‘জনসহ এ পর্যন্ত ৫০ জনের মৃত্যু



মামুনুর রশিদ, দিনাজপুর প্রতিনিধি :করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দিনাজপুরে দ্রুত গতিতে বাড়ছে। দিনাজপুরে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা অতিতের সকল রেকর্ড ছাড়িয়েছে। সোমবারের তথ্যানুসারে জেলায় নতুন সর্বোচ্চ ৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত এবং মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৫৭৮ জন। 


দিনাজপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৫৭৮ জনে পৌঁছেছে। একই সময়ে সদর উপজেলায় একজন ও বিরামপুর উপজেলায় একজনসহ মোট ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর নতুন ৫৪ জনসহ ১ হাজার ৮৫৫ জন সুস্থ হয়েছেন। তবে আক্রান্ত ২ হাজার ৫৭৮ জনের মধ্যে ১ হাজার ৮৫৫ জন সুস্থ ও ৫০ জনের মৃত্যু হওয়ায় বর্তমানে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা রয়েছে ৬৭৩ জন।  


দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা: মো: আব্দুল কুদ্দুছ জানান, সোমবার (১৭ আগষ্ট) রাত ৯টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘন্টায় ঢাকায় ও দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ৩৭৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে নতুন সর্ব্বোচ্চ ৯৪ জনের দেহে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগির সংখ্যা পৌঁছেছে ২ হাজার ৫৭৮ জনে। আর গত ২৪ ঘন্টায় সদরে একজন ও বিরামপুরে একজনসহ ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর নতুন ৫৪ জনসহ এ পর্যন্ত ১ হাজার ৮৫৫ জন সুস্থ হয়েছেন। সোমবারের শনাক্তের হার ২৫ শতাংশ। 


নতুন আক্রান্ত ৯৪ জনের মধ্যে সদর উপজেলাতেই ৩৩ জন। এছাড়া বিরলে ১১জন, বিরামপুরে ৯ জন, বীরগঞ্জে ১৭ জন, বোচাগঞ্জে ১০ জন, চিরিরবন্দরে ৪ জন, হাকিমপুরে ৩ জন, কাহারোলে ৩ জন ও পার্বতীপুর উপজেলায় ৪ জন। অপরদিকে নতুন সুস্থ ৫৪ জনের মধ্যে সদরে ২৫ জন, বিরলে ১৪ জন, বিরামপুরে ১৫ জন, বীরগঞ্জে একজন, বোচাগঞ্জে ৪ জন, চিরিরবন্দরে ৩ জন, ফুলবাড়ীতে ৩ জন, হাকিমপুর ৪ জন, খানসামায় একজন, নবাবগঞ্জে ৫ জন ও পার্বতীপুর উপজেলায় একজন। 


জেলায় আক্রান্ত ২৫৭৮ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় ১২১০ জন, বিরলে ১৬৬ জন, বিরামপুরে ২৫৭ জন, বীরগঞ্জে ৮১ জন, বোচাগঞ্জে ৭০ জন, চিরিরবন্দরে ১২২ জন, ফুলবাড়ীতে ১০৮ জন, ঘোড়াঘাটে ৭৭ জন, হাকিমপুরে ৫৪ জন, কাহারোলে ৮৯ জন, খানসামায় ৬৭ জন, নবাবগঞ্জে ৯৮ জন ও পার্বতীপুর উজেলায় ১৭৯ জন। 

তিনি জানান, সদর উপজেলায় ১৭ জন, বিরলে ৩ জন, বিরামপুরে ৪ জন, বীরগঞ্জে ৩ জন, বোচাগঞ্জে দুইজন, চিরিরবন্দরে ৫ জন, ফুলবাড়ীতে ৭ জন, হাকিমপুরে দুইজন, কাহারোলে একজন, খানসামায় একজন, নবাবগঞ্জে দুইজন ও পার্বতীপুর উপজেলায় ৩ জন। তিনি জানান, দিনাজপুর জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে ৪৮ জন। আর  করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ৩৫ জন মৃত্যুবরণ।

দিনাজপুরে সাংবাদিকদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রি প্রদান

 দিনাজপুরে সাংবাদিকদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রি প্রদান




মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি :বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ওয়ার্ল্ড ভিশনের উদ্দ্যোগে আজ দিনাজপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের মাঝে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রি প্রদান করেছে ।দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ওয়াল্ড ভিশনের পক্ষ থেকে এসব ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রি তুলে দেয়া হয় দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চু ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলালের নিকট ।

আয়োজিত অনুষ্ঠানে ওয়াল্ড ভিশনের এপিসি ম্যানেজার অনুকুল চন্দ্র বর্মন বলেন,করোনা দূর্যোগকালিন সময়ে দিনাজপুরের ৭টি উপজেলার মা ও শিশুদের জন্য আর্থিক সুবিধাসহ বিভিন্ন সহায়তায় কাজ করছে ওয়াল্ড ভিশন।

সভাপতির বক্তব্য প্রদানকালে স্বরূপ বকসী বাচ্চু বলেন, করোনা মহামারীর এসময়ে পরিবারের শিশুদের নিয়ে প্রত্যেকেই কষ্টে রয়েছেন। তিনি বলেন,বাহিরে খেলাধুলা করতে না পেরে ঘরের ভিতরে যেন বাচ্চারা অসহায় জীবনযাপনে বাধ্য হচ্ছে। করোনাকালিন সময়ে শিশুদের নিরাপদ জীবনযাপনে বাচ্চাদের জন্যে পিপিই কিংবা বিকল্প কোন পদ্ধতির উদ্ভোব করা যায় কিনা সে ব্যাপারে সকলের তিনি সকলের প্রতি আহাবান জানান। অনুষ্ঠানে প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের হাতে গ্রাউন ৬ পিস,মাক্স ১ হাজার পিস,হ্যান্ড গ্লোভস্ ২০০ পিস ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ২০পিস তুলে দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ওয়াল্ড ভিশনের এপিসি ম্যানেজার অনুকুল চন্দ্র বর্মন, প্রোগ্রাম অফিসার বার্নাড কুজুর, ডরিস লিয়া হাসদাসহ অন্যান্য প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ। প্রতিষ্ঠানটি সাংবাদিকদের করোনাকালিন সময় সংবাদ সংগ্রহের জন্য গ্রাউন, মাক্স, হ্যান্ড গোভস ও হ্যান্ড সেনিটাইজার বিতরন করা হয়।

সিরাজগঞ্জ ১- আসনে উপ- নির্বাচনে সমর্থন পান তানভির শাকিল জয়

 সিরাজগঞ্জ ১- আসনে উপ- নির্বাচনে সমর্থন পান তানভির শাকিল জয়



 মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃসাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুতে সিরাজগঞ্জ-১ আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। জাতীয় সংসদের শূন্য ঘোষিত সিরাজগঞ্জ-১ (কাজিপুর ও সিরাজগঞ্জ সদরের ৫ ইউনিয়ন) আসনটিতে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠানের ঘোষণাও দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এই আসনে আ.লীগের দলীয় প্রার্থী মনোনয়নের লক্ষ্যে কাজিপুর উপজেলা আ.লীগ সোমবার (১৭ আগস্ট) বিকেল পর্যন্ত কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা আ.লীগের সভাপতি আলহাজ্ব শওকত হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আ.লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা নাসিমপুত্র সাবেক সাংসদ প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়কে তাদের প্রার্থী হিসেবে দলীয় সমর্থন দিয়ে রেজুলেশন পাস করেছে। এ সময় কাজিপুর উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কাজিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী জানান, “আমরা সর্বসম্মতিক্রমে প্রথমে কণ্ঠভোটে এবং পরে কার্যকরি কমিটির সদস্যরা স্বাক্ষর করে প্রস্তাব পাস করেছি। বাংলাদেশ আ.লীগের সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রি জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাদের জয় ভাইকে প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকে নির্বাচনের সুযোগ দেবেন এমনটিই আমাদের আশা।” সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আ.লীগের সহসভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র জিএম তালুকদার, যুগ্ন সম্পাদক ছাইদুল ইসলাম তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হান্নান তালুকদার। সভায় উপজেলার ১২ টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ উপস্থিত ছিলেন।

নওগাঁয় বন্যার্ত্য গরীব অসহায় দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

 নওগাঁয় বন্যার্ত্য গরীব অসহায় দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ



 মোঃ ফিরোজ হোসাইন রাজশাহী ব্যুরো:নওগাঁর মান্দা ও আত্রাই উপজেলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ গরীব অসহায়  পরিবারগুলোর মধ্যে নওগাঁ ওয়েল ফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কর্মসূচী শুরু হয়েছে। 


এই কর্মসূচীর অংশ হিসেবে গতকাল সোমবার সকাল ১০টা থেকে আত্রাই উপজেলার  কালিকাপুর ও হাটকালুপাড়া  ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। 


নওগাঁ ওয়েলফেয়ার  অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সরকারের অবসরপ্রাপ্ত সিনিয়র সচিব সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী এবং সাধারণ সম্পাদক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নাক কান গলা বিভাগের প্রধান ডাঃ মোঃ  মঞ্জুরুল আলমের পক্ষ থেকে এসব ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন কালিকাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রভাষক নাজমুল হক নাদিম, নওগাঁ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের প্রচার সম্পাদক মো. কায়েস উদ্দিন, নির্বাহী সদস্য ডাঃ আতিকুর রহমান প্রান্তর এবং কোষাধ্যক্ষ মোঃ খলিলুর রহমানসহ অন্যরা।

ত্রাণ সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে চাল, ডাল, তেল এবং আলু। পর্যায়ক্রমে মান্দা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে বন্যা এলাকায়   গরীব অসহায় পরিবারগুলোর মধ্যে অনুরুপ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হবে।

হতাশ সেকায়েপের মডেল শিক্ষকরা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

 হতাশ সেকায়েপের মডেল শিক্ষকরা,  মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা




মোঃকাউসার আলী,চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ


মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,

আপনি নিশ্চয় অবগত আছেন যে,বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন "সেকেন্ডারি এডুকেশন কোয়ালিটি এ্যান্ড অ্যাকসেস এনহেন্সম্যান্ট প্রজেক্ট(সেকায়েপ)"কর্তৃক ৬১ জেলার প্রত্যন্ত এলাকায় এম.পি.ও, নন এম.পি.ও এবং সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগপ্রাপ্ত প্রায় ৫২০০ জন(পাঁচ হাজার দুইশত) বিষয়ভিত্তিক (ইংরেজি,গণিত এবং বিজ্ঞান) অতিরিক্ত শ্রেণি শিক্ষক (এসিটি) আজ চরম হতাশার মধ্যে নিমজ্জিত।শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষা এবং আশার আলো জ্বালাতে এসে আজ তারাই চরম হতাশা এবং অন্ধকারে নিমজ্জিত।

আপনার সদয় অবগতি ও কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য জানানো যাচ্ছে যে,বিশ্বব্যাংক এবং বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে ২০০৮ সালে চালু করা হয় সেকায়েপ প্রকল্প এবং সেই সেকায়েপ প্রকল্পে ২০১৫ সালে শিক্ষার গুণগতমান বৃদ্ধির জন্য একটি উল্লেখযোগ্য কম্পোনেন্ট "অতিরিক্ত শ্রেণি শিক্ষক (এসিটি)" নিয়োগ করা হয় যা শিক্ষাক্ষেত্রে একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ।এই এসিটি শিক্ষকরা নিয়মিত ক্লাসের বাইরে তাদের নিজ নিজ বিষয়ে মোট ৩৭,২০,০৯৪ টি অতিরিক্ত ক্লাস নেন এবং এর ফলে ছাত্রছাত্রীদের মাঝে ইংরেজি,গণিত এবং বিজ্ঞান বিষয়ে ভীতি দূর হয় এবং শিক্ষার্থীরা কোচিং বিমুখ হয়।এছাড়াও এই এসিটিরা স্ব স্ব উপজেলায় বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজ যেমন বাল্যবিবাহ রোধ,যৌতুক প্রথা রোধ,শিক্ষার্থীদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সৃষ্টি,পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা সৃষ্টির কাজে অংশগ্রহণ করেন।যা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এবং শিক্ষার্থীদের মাঝে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনে।

কিন্তু সেকায়েপ শিক্ষকদের মেয়াদ ৩ বছর হলেও নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি এবং এসিটি অপারেশন ম্যানুয়াল-২০১৫ এর ৩৬ নং ধারা অনুযায়ী শিক্ষার মানোন্নয়নে অভিজ্ঞতা এবং কোয়ালিটি বিবেচনা করে এসিটিদের স্থায়ীকরণের কথা উল্লেখ আছে।উল্লেখ্য যে,বিশ্বব্যাংক তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে যে সেকেয়েপের এসিটি কম্পোনেন্ট একটি সফল কম্পোনেন্ট।কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় শিক্ষা  মন্ত্রণালয় এখন পর্যন্ত এই মডেল মেধাবি শিক্ষকদের কোন স্থায়ী ব্যবস্থা করতে পারেনি।ইতোমধ্যে সকল জেলা থেকে আপনার সুদৃষ্টি কামনার জন্য মাননীয় মন্ত্রি,মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, মাননীয় এম.পি ও জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থায়ীকরণের জন্য স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।সে হিসাবে চুয়াডাঙ্গা জেলা থেকে এসিটিদের পক্ষে স্মারকলিপি প্রদান করেন এসিটি সুমন ইকবাল এবং শোভন রবিউল।


হে মানবতার মা,

শিক্ষার আলো জ্বালাতে এসে সেই শিক্ষকরাই আজ অন্ধকারে কারণ গত ৩১ মাস তাদের নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি। ফলে তারা একপ্রকার হতাশাগ্রস্ত জীবন যাপন করছে।হে মানবতার মা আপনিই পারেন এই মডেল এবং মেধাবি শিক্ষকদের হতাশা দূর করে আশার আলো জ্বালাতে।গত ৩১ মাস তারা চাকরি হরিয়ে সামাজিকভাবে, অার্থিকভাবে এবং পারিবিরিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন হচ্ছে।উল্লেখ্য যে, এই মডেল শিক্ষকদের অধিকাংশই পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১ম শ্রেণি প্রাপ্ত।

তাই আপনার কাছে বিনীত প্রার্থনা এই যে,আপনি আপনার ব্যাক্তিগত হস্তক্ষেপের মাধ্যমে এবং মানবিক দিক বিবেচনা করে এই মেধাবি মডেল শিক্ষকদের হারিয়ে যাওয়া মর্যাদা ফিরিয়ে দেবেন এবং তাদেরকে এসইডিপিতে অন্তর্ভুক্ত করে শিক্ষার গুণগতমান বৃদ্ধিতে অগ্রণী ভুমিকা রাখবেন।আপনার মুখের দিকেই তাকিয়ে আছে ৫২০০ জন শিক্ষকদের পরিবার।

নওগাঁর রাণীনগরে স্বাক্ষর জাল করে ম্যানেজিং কমিটি গঠনের অভিযোগ

নওগাঁর রাণীনগরে স্বাক্ষর জাল করে ম্যানেজিং কমিটি গঠনের অভিযোগ


মোঃ ফিরোজ হোসাইন রাজশাহী ব্যুরো:নওগাঁর রাণীনগরের গহেলাপুর এন.এম উচ্চবিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের স্বাক্ষর জাল ও সরকারি বিধি অমান্য করে নতুন ম্যানেজিং কমিটি গঠনের অভিযোগ উঠেছে ওই বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,রাণীনগর উপজেলার গহেলাপুর এন.এম উচ্চবিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির মেয়াদ চলতি বছরের ১৫ মে শেষ হয়েছে। করোনা ভাইরাস, সাধারণ ছুটি ও লকডাউনের কারণে গত ২৩ মার্চ রাজশাহী মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড থেকে পত্রের মাধ্যমে ম্যানেজিং কমিটি নির্বাচন সংক্রান্ত সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেন। ফলে নতুন কোন কমিটি গঠন হয়নি। পরবর্তীতে গত ১০জুন নতুন কমিটি গঠনের জন্য শিক্ষা বোর্ড থেকে নির্দেশনা আসলে গত ২৩ জুলাই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান এডহক কমিটি গঠনের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকশিক্ষাবোর্ড রাজশাহীতে আবেদনপত্র জমা দেন। কিন্তু পরে তিনি বিশ্বস্ত সূত্রে জানতে পারেন বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি নাজিম উদ্দীন আহম্মেদ নতুন ম্যানেজিং কমিটি গঠন করেছেন। তিনি আরো জানতে পারেন ওই নতুন ম্যানেজিং কমিটি গঠনের জন্য সরকারি বিধি অমান্য ও তার স্বাক্ষর জাল করে শিক্ষাবোর্ডে জমা দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান গত রোববার রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি নাজিম উদ্দীন আহম্মেদ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিজে স্বাক্ষর করেছেন। আমি স্বাক্ষর জাল করিনি। শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান“প্রধান শিক্ষক”হওয়ার জন্য আমাকে প্রস্তাব দিলে আমি তা প্রত্যাখ্যান করেছি। এরপর থেকে তিনি আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, তিনি আমার স্বাক্ষর জাল করে শিক্ষাবোর্ডে আবেদনপত্র জমা দিয়েছেন। তাই তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন বলেন,বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আশাশুনিতে ভারতীয় রুপিসহ ছিনতাইকৃত ৩৮ হাজার টাকা উদ্ধার,আটক-২

 আশাশুনিতে ভারতীয় রুপিসহ ছিনতাইকৃত ৩৮ হাজার টাকা উদ্ধার,আটক-২



আহসান উল্লাহ বাবলু  উপজেলা   প্রতিনিধি:আশাশুনিতে পুলিশী অভিযানে ভারতীয় রুপিসহ ছিনতাইকৃত ৩৮হাজার উদ্ধার করা হয়েছে এবং ২ জন ছিনতাইকারীকে আটক করা হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, 


পিপিএম(বার) এর দিক নির্দেশনায়, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, দেবহাটা সার্কেল শেখ ইয়াছিন আলীর তত্বাবধায়নে, আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির সরোজমিনে নেতৃত্বে এসআই হাসানুজ্জামন সহ সঙ্গীয় ফোর্স এর সহায়তায় অভিযান 


পরিচালনাকালে মুন্সীগঞ্জের শফিকুল ইসলামের দেড় লক্ষ টাকা ছিনতাই এর ঘটনায় ১২(৮)২০২০ নম্বর মামলার প্রেক্ষিতে রবিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের মহাজনপুর গ্রামের রিয়াজউদ্দিন সরদার এর ছেলে আব্দুস সালাম (৫০) ও একই গ্রামের মৃত মুনসুর হোসেন এর ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন (৩৭) কে আটক করেন। এসময় জাহাঙ্গীর হোসেন এর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তার বাড়ির শোকেস এর ভিতর থেকে ও তার মোবাইলের কভারের ভিতর থেকে ভারতীয় ১০০ রুপি মূল্যমানের ১০টি নোট এবং নগত ৩৮ হাজার উদ্ধার করেন। পরে 


এসআই জাহাঙ্গীর হোসেন বাদী হয়ে আশাশুনি থানায় ১৯৪৭ সালের বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রন আইনের ২৩ ধারায় ১৩(৮)২০২০ মামলা রুজু 


করে আটককৃত আসামীদেরকে সোমবার দুপুরে বিচারার্থে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ফলোআপঃহবিগঞ্জে সদর হাসপাতাল মর্গে চলছে দালালদের রমরমা বাণিজ্য, লাশের স্বজনদের জিম্মি করে টাকা আদায়

 ফলোআপঃহবিগঞ্জে সদর হাসপাতাল মর্গে চলছে দালালদের রমরমা বাণিজ্য, লাশের স্বজনদের জিম্মি করে টাকা আদায়



লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে চলছে রমরমা বাণিজ্য। হবিগঞ্জ জেলার ৮টি থানার একমাত্র ভরসা হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গ। হত্যা ও দূর্ঘটনা কবলিত লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে পুলিশ মর্গে প্রেরণ করলেই খুশিতে আত্মহারা হয়ে উঠে এক শ্রেণীর দালালরা।


লাশের সাথে আসা স্বজনদের জিম্মি করে মদ্যপান লাশ কাটা সেলাই প্যাকেট করা ইত্যাদি নানান অযুহাতে হাজার-হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় এরা। টাকা না দিলে উত্তেজিত হয়ে নোংরা ভাষায় গালমন্দসহ অগোচালো করে রেখে দেয় 


মৃত দেহ খোঁজ নিয়ে জানা গেছে গত কিছুদিন আগে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের প্রধান মর্গ ছাবু মিয়া মারা যাবার পর মর্গে ওই শুণ্য পদে চাকরি পাবার আশায় অনেকেই দৌড়ঝাপ দিয়েছেন বিভিন্ন মহলে। বর্তমানেও তার 


ওই পদ শুণ্য থাকায় ফায়দা লুটে নিচ্ছে এক শ্রেণীর দালালরা। হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন  ডাঃ এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান জানান, লাশের সাথে আসা স্বজনদের কাছ থেকে জোর করে টাকা আদায়ের বিষয়টি অন্যায়।


বিষয়টি খতিয়ে দেখে দ্রুত  ব্যবস্থা নেয়া হবে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ হেলাল উদ্দিন জানান। লাশের স্বজনদের কাছ থেকে টাকা আদায় গুরুতর অন্যায় বিষয়টি আরএমও দের জানানো হবে এবং এ ব্যাপারে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।