শার্শার ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মুরাদের ইন্তেকাল

শার্শার ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মুরাদের ইন্তেকাল



শার্শা প্রতিনিধি: ফজলুর রহমানঃ

শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক,উলাশী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত ইউপি সদস্য অহিদুজ্জামান মুরাদ আজ বুধবার সকাল ৬ টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন।

(ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) অহিদুজ্জামান মুরাদের নামাজের জানাজায় উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ মোঃ নুরুজ্জামান,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল,শার্শা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন,উলাশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আয়নাল হক,উলাশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাহেব আলী,শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।

আশাশুনিতে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার

আশাশুনিতে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা   পরিদর্শনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার



আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা  প্রতিনিধিঃ    আশাশুনিতে সদর ইউনিয়নের সবদালপুর ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন, রিংবাঁধ নির্মাণের কাজের তদারকি ও বুধহাটা ইউনিয়নের নওয়াপাড়া বেড়ীবাঁধ ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা। বুধবার সকালে তিনি সবদালপুর বেড়িবাঁধ ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন ও রিংবাঁধ নির্মাণ কাজ তদারকি করেন। এছাড়াও বিকালে উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের নওয়াপাড়া বেড়িবাঁধ ভাঙ্গন পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি বলেন, পানিবন্দি এলাকার সাধারণ লোকজনদের নিরাপদ স্থানে

আসার জন্য বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে খাবার স্যালাইন এবং ঔষধ দেওয়া হচ্ছে। এসময় তিনি বানভাসী মানুষদের দুঃখ লাঘবে সব সময় পাশে থেকে কাজ করার আশ্বাস প্রদান করেন। পৃথক পৃথক স্থানে পরিদর্শনকলে পিআইও সোহাগ খান, সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন, বুধহাটা ইউপি চেয়ারম্যান আ ব ম মোসাদ্দেক ও জনপ্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আশাশুনি ৮০ সহস্রাধিক মানুষ পানিবন্দী/খাদ্য পানি স্যানিটেশন বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে

 আশাশুনি ৮০ সহস্রাধিক মানুষ পানিবন্দী/খাদ্য পানি স্যানিটেশন বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে


আহসান উল্লাহ  বাবলু উপজেলা প্রতিনিধি: আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর, শ্রীউলা ও আশাশুনি সদরে আম্ফানে ভেড়ীবাঁধ ভাঙ্গনের পর বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) নদীর পানি অস্বাভাবিক ভাবে বৃদ্ধি পেয়ে ও প্রচুর বৃষ্টিপাতের প্রভাবে রিং বাঁধ ভেঙ্গে ৮০ সহস্রাধিক মানুষ পানি বন্দী হয়ে পড়েছে। এলাকার খাদ্য, সুপেয় পানি, স্যানিটেশন ব্যবস্থা না থাকায় হাহাকার বয়ে যাচ্ছে। সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়া ও বিদ্যুত না থাকায় যোগাযোগের অভাবে মানুষ বিচ্ছিন্ন দীপে বসবাসের মত বসবাস করছে। ৩ মাস আগে ইউনিয়ন ৩টির একাধিক স্থানে আম্ফানের তান্ডবে ভেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়ে মানুষ ঘরবাড়ি, মৎস্য ঘের, ফসল, সহায় সম্পদ হারিয়ে করুন পরিণতির সাথে যুদ্ধ করে কোন রকমে বেঁচে ছিল। গত বৃহস্পতি ও শুক্রবার নদীর পানি স্বাভাবিক জোয়ারের থেকে কমপক্ষে ৩/৪ ফুট বেশী উচু হয়ে রিং বাঁধ ভেঙ্গে ইউনিয়ন ৩টির নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হতে শুরু করে। রবিবার পর্যন্ত প্রতাপনগর ইউনিয়নের (সম্পুর্ণ) ১৭টি গ্রামের ৩৬ সহ্রাধিক মানুষ, শ্রীউলা ইউনিয়নের (সম্পূর্ণ) ২২টি গ্রামের ৩৭ সহস্রাাধিক মানুষ এবং আশাশুনি সদর ইউনিয়নের আংশিক ৯ টি গ্রামের প্রায় ৭ হাজার মানুষ প্লাবিত হয়। প্রতাপনগর ও শ্রীউলা ইউনিয়নের মানুষ বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্র, স্কুল, বাড়ির ছাদ, রাস্তার উপর পলিথিন দিয়ে ছেয়ে বসবাস করছেন। অনেকে আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। পুরো এলাকার সড়ক ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। খাদ্য সংকট ও সুপেয় পানির অভাব প্রকট হয়ে দেখা দিয়েছে। স্যানিটেশন ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। পশু পাখির বসবাস ও খাদ্য যোগান দেওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। কাচা ঘরবাড়ি ভেঙ্গে পড়তে শুরু করেছে। কাদাকাটি প্রতাপনগর সড়কের আনুলিয়া থেকে প্রতাপনগর এবং আশাশুনি শ্রীউলা সড়কের অর্ধেকের বেশী পানি নিমজ্জিত ও সড়কের উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হতে থাকায় ভঙ্গস্তুপে পরিণত হয়েছে। পানি আটকানো সম্ভব না হওয়ায় পানি পাশ্ববর্তী ইউনিয়নের দিকে ক্রমে ক্রমে ধাপিত হচ্ছে। সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ বিভিন্ন কর্মকর্তা ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন। শ্রীউলা ইউনিয়নে ৭২ মেঃটন ও প্রতাপনগর ইউনিয়নে ১৩ ও ২৫ মেঃটন চাউল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। মূল বাঁধ নির্মানের কাজ এখনই শুরু সম্ভব না হলেও দ্রুত রিং বাঁধ আটকে এলাকাবাসীকে রক্ষার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জেলা প্রশাসক ঘোষণা দিয়েছেন। এসময় প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন, শ্রীউলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিল ও আশাশুনি সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন এসময় তাদের সাথে ছিলেন।

মাত্র ৫ মিনিটে ঘাড়ের কালো দাগ দূর করুন।

মাত্র ৫ মিনিটে ঘাড়ের কালো দাগ দূর করুন।





অনেকেরই দেখা যায়, চেহারার তুলনায় ঘাড় অনেক কালো থাকে। ঘাড় ফর্সা করার জন্য অনেকে নিয়মিত পার্লারে যান। কিন্তু কিছু দিন পর আবার ঠিকই ঘাড় কালো হয়ে যায়। তাই জে’নে নিন মাত্র ৫ মিনিটে যেভাবে গলার কালো দাগ দূ’র ক’রতে পারবেন-

উপাদান: কাঁচা দুধ, চন্দন, বেসন, লেবুর রস।

প্রথমে লাগবে কাঁচা দুধ। কাঁচা দুধে প্রচুর পরিমানে ল্যাকটিক এসিড থাকে। যা আপনার শ’রীরের যেকোনো অংশ থেকে কালো দাগ দূ’র ক’রতে সহায়তা করে। এই দুধে এমন কিছু উপাদান থাকে, যা আপনার কালো দাগ দূ’র ক’রতে এবং ডেড সেল দূ’র ক’রতে সাহায্য করে।

আপনি ২ চা চামচের মত খাটি দুধ নিয়ে নিবেন। এর মধ্যে কিন্তু গুড়া দুধ নিলে হবে না। এর মধ্যে আপনি আর একটি উপাদান নিবেন। তা হল চন্দন কাঠের গুড়া।

আপনি যদি কাঁচা দুধ ও চন্দন কাঠের গুড়ো আপনার শ’রীরে লা’গিয়ে রাখেন। তবে কিন্তু এ দুইটি উপাদান আপনার শ’রীরের যেকোনো কালো দাগ শুষে নিবে। এ উপাদান গুলো যখন আপনার ত্বকের কালো দাগ শুষে নিবে, তখন আপনার ত্বক উজ্জ্বল ও সাদায় পরিনত হবে।

তবে এর কা’র্যকারিতা বাড়ানোর জন্য আরো একটি উপাদান নিতে হবে। বাজারে ত্বকের কালো দাগ দূ’র করার অনেক প্যাক পাওয়া যায়। ওই প্যাকেও কিন্তু কাঁচা দুধ ও চন্দনের গুড়া থাকে। এগুলো শ’রীরে, বগলে বা যে কোনো কালো দাগের ওপর লা’গালে খুব ভালো কাজ করে।

কাঁচা দুধের মধ্যে হাফ চা চামচের মত চন্দনের গুড়া নিয়ে নিবেন। তারপর আপনি বেসন বা চালের গুড়া যেকোনো একটি নিয়ে নিবেন। বেসনে এমন কিছু উপাদান আছে, যা আপনার কালো দাগ গুলো নরম করে দেয়। আপনার শ’রীরে ঘামের কারণে যে কালো দাগগুলো হবে তা আপনি বেসন দিয়ে দূ’র ক’রতে পারবেন।

এছা’ড়াও আপনি সব সময় চেষ্টা করবেন যেন আপনার গলায় ঘাম জমে না যায়। ঘাম জমলে সেখানে কালো দাগ প’ড়ে। আপনি ঘেমে গেলে পরি’ষ্কার পানি দিয়ে আপনার গলা ধু’য়ে নিবেন। বেশি সময় গলায় ঘাম জ’মে থাকতে দিবেন না।

আপনি দেড় চামচের মত বেসনের গুড়া নিয়ে নিবেন। এর মধ্যে আরো নিবেন ভিটামিন সি বা সাই’ট্রিক এ’সিড দ্বা’রা পরিপূ’র্ন লেবু। এক চা চামচের মত লেবুর রস নিয়ে নিবেন। খেয়াল রাখবেন লেবুর রস যেন বেশি না হয়। বেশি হলে উপাদানগুলো যখন আপনি ঘসে ব্যবহার করবেন তখন জ্বা’লা পোড়া ক’রতে পারে।

এবার সব উপাদানগুলো এক সাথে মি’শিয়ে পেস্টের মত করে নিবেন। এ পেস্টটি আপনি যেকোনো এয়ার টাইট কন্টিনারে রেখে ব্যবহার ক’রতে পারবেন। তবে তিন দিনের বেশি রাখা ঠিক হবে না। তাই প্যাকটি ব্যবহার কারার আগে বা’নিয়ে নিলে ভালো হবে।

এ প্যাকটি গলায় ব্যবহার করার পূ’র্বে আপনি গলা ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালো ভাবে পরি’ষ্কার করে নিবেন। যাতে সেখানে ধূলা-বালি, ময়লা জমে না থাকে। তারপর আপনি ৩ আঙ্গুলে প্যাকটি লা’গিয়ে নিন এবং আপনার গলায় ভালো ভাবে ম্যাসাজ করুন। এমন ভাবে ম্যাসাজ ক’রবেন, যাতে আপনার গলার প্রতিটা লোম কূ’পের গো’ড়ায় পেস্ট পৌছে যায়।

আপনি এ পেস্টটি ৫ মিনিট আপনার গলায় লা’গিয়ে রাখবেন। ৫ মিনিট পর দেখবেন প্যাকটি একে বারে শু’কিয়ে গেছে। শু’কিয়ে গেলে প্যাকটি টা’নটা’ন হয়ে যাবে। এ ভাবে যদি আপনি প্রত্যেক দিন ব্যবহার করেন তবে আপনার গলার কালো দাগ দূ’র হবে।

আপনি যদি প্যাকটি প্রতিদিন দুপুর বেলা গোসলের পূ’র্বে ব্যবহার করেন তবে ভালো ফল পাবেন। আপনি চাইলে প্যাকটি রাতেও ব্যবহার ক’রতে পারেন। এ ক্ষেত্রে ঘুমানোর আগে যেকোনো ময়শ্চারাইজার লা’গিয়ে ঘুমাবেন। এভাবে যদি আপনি ১৫ থেকে ২০ দিন পেস্টটি ব্যবহার করেন, তবে আপনার গলা বা ঘাড়ের কালো দাগ দূ’র হয়ে যাবে।

কুমিল্লার চান্দিনায় নিখোঁজ কাঠমিস্ত্রি যুবকের অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার

কুমিল্লার চান্দিনায় নিখোঁজ কাঠমিস্ত্রি যুবকের অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার



শাহ আলম জাহাঙ্গীর

ব্যুরো চিফ, কুমিল্লা


কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলায় নিখোঁজের ৫ দিন পর ধান ক্ষেত থেকে কাঠমিস্ত্রি সুজন চন্দ্র সরকার (২২) নামের এক যুবকের অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করেছে চান্দিনা থানা পুলিশ।


বুধবার (২৬ আগস্ট) বিকেলে চান্দিনা উপজেলার ডুমুরিয়া ও দোবারিয়া গ্রামের ফসলি মাঠের ধান ক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।


নিহত সুজন চন্দ্র সরকার কেরনখাল ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামের ক্ষিতিশ চন্দ্র সরকারের ছেলে। তিনি পেশায় কাঠ মিস্ত্রি।


নিহতের বড় ভাই যুবরাজ সরকার জানান, শুক্রবার বিকেলে তার স্ত্রীর সাথে কথা কাটাকাটি করে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। তারপর থেকে তার কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। আমরা আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতেও খোঁজ নিয়েছি কোথাও পাইনি। আজ লোক মারফত শুনতে পাই দোবারিয়া ধান ক্ষেতে লাশ পাওয়া গেছে। আমরা সেখানে গিয়ে দেখি আমার ভাইয়ের মরদেহ অর্ধগলিত। ওই জমির মালিক আনোয়ার মেম্বার শ্রমিক দিয়ে ধান কাটার সময় তার ক্ষেতে অর্ধগলিত মরদেহ দেখে থানায় খবর দেয়। আমরা গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করি।


এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামস্উদ্দীন মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানান- প্রাথমিক তদন্তে নিহতের শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন পাওয়া যায়নি। হত্যা না আত্মহত্যা তা নিশ্চিত ভাবে বলা যাচ্ছে না। মরদেহ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে ঐতিহাসিক ৭ই জুন ৬ দফা দিবস উপলক্ষে অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতা

 জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে ঐতিহাসিক ৭ই জুন ৬ দফা দিবস উপলক্ষে অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতা





মীরকাশেম,চকরিয়া প্রতিনিধি:

চকরিয়া সরকারি কলেজের ইংরেজি ১ম বর্ষ সন্মান শ্রেণির শিক্ষার্থী মো. রাশেদুল ইসলাম পুরো বাংলাদেশে ১০০ জন বিজয়ীর মধ্যে ৬৮ তম স্থান অধিকার করেছে।  কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষরিত সনদ প্রদান অনুষ্ঠানে কক্সবাজারের একমাত্র বিজয়ী চকরিয়া সরকারি কলেজের ইংরেজি সন্মান বিষয়ের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী মো. রাশেদুল ইসলামকে সনদ ও নগদ দশ হাজার টাকা তুলে দিচ্ছেন, 

কক্সবাজারের মাননীয় জেলা প্রশাসক, মাননীয় পুলিশ সুপার, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ।


অভিনন্দন রাশেদ। তোমার কৃতিত্বে চকরিয়া সরকারি কলেজ, চকরিয়াবাসীও কক্সবাজারের আপামর জনগণ গর্বিত ও আনন্দিত। 

তোমার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করছি।

জেলা প্রশাসকের কনফারেন্স রুম।।

তার বাড়ি শাহারবিল ইউনিয়নের কোরালখালী গ্রামে। তার বাবার নাম জনাব মনছুর আলম ও মায়ের নাম দিলহার বেগম।

চকরিয়া সরকারি কলেজ তার কৃতিত্বে গর্বিত ও আনন্দিত। 

অভিনন্দন রাশেদ। 

জয় বাংলা 

জয় বঙ্গবন্ধু।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কে মিথ্যা মামলার স্মারক লিপি প্রদান করে চকরিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান ফোরাম

 কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কে মিথ্যা মামলার স্মারক লিপি প্রদান করে চকরিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান ফোরাম




মীরকাশেম চকরিয়া প্রতিনিধি,

চকরিয়ায় গরু চুরির অভিযোগ নিয়ে হারবাং ইউনিয়নে নারীদের কোমরে রশি বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম এর  বিরুদ্ধে চকরিয়া থানায় মামলা করায়। দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এবং গরু চুরির আলোচিত ঘটনায় হারবাং এর চেয়ারম্যান সম্পূর্ণ নির্দোষ হওয়ার পরেও তাকে জড়িত করার প্রতিবাদে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক বরাবরে চকরিয়া উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ এর পক্ষ থেকে স্মারকলিপি ।কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কে মিথ্যা মামলার স্মারক লিপি প্রদান করে চকরিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান ফোরাম:

মীরকাশেম চকরিয়া প্রতিনিধি,

চকরিয়ায় গরু চুরির অভিযোগ নিয়ে হারবাং ইউনিয়নে নারীদের কোমরে রশি বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম এর  বিরুদ্ধে চকরিয়া থানায় মামলা করায়। দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এবং গরু চুরির আলোচিত ঘটনায় হারবাং এর চেয়ারম্যান সম্পূর্ণ নির্দোষ হওয়ার পরেও তাকে জড়িত করার প্রতিবাদে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক বরাবরে চকরিয়া উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ এর পক্ষ থেকে স্মারকলিপি ।

দারুল আরকাম শিক্ষক কল্যাণ সমিতির মানববন্ধন আগামী কাল

দারুল আরকাম শিক্ষক কল্যাণ সমিতির মানববন্ধন আগামী কাল





আব্দুর রাজ্জাকঃ

দারুল মাদ্রাসার দ্রুত প্রকল্প পাশ বকেয়া বেতন পাওয়া এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনায় আগামী কাল ২৭শে আগষ্ট রোজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় দারুল আরকাম কেন্দ্রীয় শিক্ষক কল্যাণ সমিতির উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে।

এতে প্রত্যেক জেলার দারুল আরকাম শিক্ষকদেরকে যথা সময়ে উপস্হিত থাকার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সেক্রেটারী।

আত্রাইয়ে আব্দুল খালেক বিশার ওপর বর্বর হামলার প্রতিবাদে ও গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

আত্রাইয়ে আব্দুল খালেক বিশার ওপর বর্বর হামলার প্রতিবাদে ও গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন





মোঃ ফিরোজ হোসাইন রাজশাহী ব্যুরোঃনওগাঁর আত্রাইয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব আব্দুল খালেক বিশার ওপর বর্বর হামলার প্রতিবাদে ও হামলাকারীকে দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার দুপুরে উপজেলা বান্দাইখাড়া বাজারে সর্বস্তরের জনগনের ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত এলাকাবাসী ও অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, গত ২৩ তারিখে আত্রাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল খালেক (বিশা) কাছ থেকে বালু ব্যবসায়ী ও কথিত সাংবাদিক উত্তাল মাহমুদ ৩ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করলে তা দিতে অস্বীকার করায় সন্ত্রাসী কায়দায় আলহাজ্ব আব্দুল খালেক বিশার ওপর বর্বর হামলা চালায়। 


মানববন্ধনে অংশগ্রহকারী হাটকালুপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি শাহারিয়া সেতু বলেন, নদীর জিয়া খালের মাটি জমির মালিকদের হুমকী ও অপসরণ করে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ, এছাড়াও সে ডিস ব্যবসায়ীর কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে নানান অজুহাতে মোটা অংকের টাকা চাঁদা আদায় করে। সাংবাদিকতার লেবাস পরে তার বিভিন্ন অপকর্মের প্রতিবাদে ও তাকে গ্রেফতারের দাবীতে করেন। 


বক্তারা বান্ধাইখাড়া এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে ও তার অত্যাচার থেকে রক্ষা পেতে এই কথিত সাংবাদিক উত্তাল মাহমুদকে দ্রুত আটক করে তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। 


এসময় মানব বন্ধনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হাটকালুপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সনি সরকার, ডিস ব্যবসায়ী রিপন, ধনপাড়া গ্রামের বিদ্যুৎ সহ এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণ।

মাগুরার শ্রীপুরে প্রতিবন্ধী ও হরিজন সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে চেক বিতরণ

মাগুরার শ্রীপুরে প্রতিবন্ধী ও হরিজন সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে চেক বিতরণ


মো:রাসেল হোসেন,শ্রীপুর(মাগুরা)প্রতিনিধিঃমাগুরার শ্রীপুর উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উদ্যোগে বুধবার প্রতিবন্ধী ও হরিজন সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে উপবৃত্তির চেক বিতরণ করা হয়েছে।

শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়াছিন কবীর প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ চেক বিতরণ করেন। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ওয়াসিম আকরাম।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ওয়াসিম আকরাম জানান,শ্রীপুর উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়ুয়া ১৪৮ জন প্রতিবন্ধী ও ১২০ জন হরিজন সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে এ উপবৃত্তির চেক বিতরণ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ুয়া প্রত্যেক প্রতিবন্ধীকে মাসিক ৭৫০ টাকা, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮০০ টাকা, কলেজ পর্যায়ের ৯০০ টাকা ও অনার্স পর্যায়ের প্রত্যেককে ১৩০০ টাকা করে এবং হরিজন সম্প্রদায়ের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ুয়া প্রত্যেক প্রতিবন্ধীকে মাসিক ৭০০ টাকা, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮০০ টাকা, কলেজ পর্যায়ের ১২০০ টাকা ও অনার্স পর্যায়ে প্রত্যেককে ১হাজার ৪ শত টাকা করে সর্বমোট প্রায় ১৪ লাখ টাকার চেক প্রদান করা হয়েছে।

মাধবপুরে স্ত্রীকে লুকিয়ে রেখে শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা

 মাধবপুরে স্ত্রীকে লুকিয়ে রেখে শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা


লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় সম্পদের লোভে স্ত্রীকে লুকিয়ে রেখে স্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা গুমরে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। উদ্ধার হওয়ার পর বুধবার (২৬ আগষ্ট) স্ত্রী হামিদা বেগম বাদী হয়ে স্বামী আওয়াল মিয়া সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কগ -৬ হবিগঞ্জে পাল্টা মামলা দায়ের করেন। পরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আসমা বেগম বিষয়টি তদন্তের জন্য ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। 


মাধবপুর থানাকে নির্দেশ প্রদান করেন। জানাযায়, উপজেলার রতনপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নাফের ছেলে আব্দুল আউয়াল মিয়া প্রায় ছয় বছর আগে ফরহাদপুর গ্রামের মোছা: হামিদা বেগমকে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকে ভয়ভীতি ও বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে আউয়াল মিয়া তার স্ত্রী হামিদা বেগমের প্রায় ৩০ লক্ষ টাকার সম্পদ বিক্রি করে দেয়।সর্বশেষ গত বছর হামিদা বেগম তার পাঁচ শতাংশ জমি ছোট ভাইয়ের ছেলে ও স্বামীর নামে দলিল করে দেয়। 


এসময় সে মৌখিক শর্ত রাখে তার মৃত্যু পর্যন্ত তাকে দেখাশোনা করতে হবে। কিন্তু বিশেষ প্রয়োজনে ছোট ভাইয়ের ছেলের নামের আড়াই শতাংশ জমি বিক্রি করে দেয়। এনিয়ে ভাই ইদ্রিস আলীর সাথে বোন হামিদা বেগমের মনোমালিন্য হয় এবং সালিশ বিচারের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলে। এক পর্যায়ে আব্দুল আউয়াল তার স্ত্রীকে কৌশলে মৌলভীবাজার জেলার। 


বড়লেখা উপজেলা নিয়ে এক বাড়িতে রেখে এসে শ্বশুর বাড়ির লোকজন ও পূর্ব থেকে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ চলে আসা তার মামার বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা গুমরে মামলা দায়ের করে।পরে হবিগঞ্জ অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কগ- ৬  তদন্তের জন্য মামলাটি সি আই ডি হবিগঞ্জ কে নির্দেশ প্রদান করে। মামলার এক নাম্বার আসামি মো: ইদ্রিস আলী (৪০) জানান, এই মামলার কারণে আমি সপরিবারে ১১ মাস যাবত পলাতক ছিলাম।


জমিজমা বিক্রি করে প্রায় ২৩/২৪ লাখ টাকা নষ্ট করে আমি নিঃস্ব হয়ে গেছি। এই মিথ্যা মামলার ১০ নম্বর আসামি চিন্তায় চিন্তায় স্ট্রোক করে মারা গেছে। আমার বোন উদ্ধার হওয়ায় এখন সব আসামিরা বাড়ি ফিরে আসছে। হামিদা বেগম জানান, বিয়ের পর থেকে আমার স্বামী আওয়াল মিয়া আমার প্রায় ৩০ লক্ষ টাকার জমি বিক্রি করে টাকা নিয়ে গেছে এখন ভাইয়ের সাথে আমার।


বিরোধের সুযোগ নিয়ে আমাকে বড়লেখায় রেখে এসে আমার ভাই সহ আত্মীয় স্বজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা গুমরে মামলা করেছে। একপর্যায়ে আমি বাড়িতে চলে আসতে চাইলে আমার স্বামী আওয়াল মিয়া আমাকে হত্যার পরিকল্পনা করে সিলেটে নিয়ে যায়। বিষয়টি আমি বুঝতে পেড়ে সিলেটের জালালাবাদ থানার টুকের বাজার। 


ইউনিয়নের নাজিরেরগাঁও গ্রামের আছির আলীর সহযোগিতায় পরিবারের সদস্যদের যোগাযোগ করলে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আবুল খায়ের কয়েকজন মুরুব্বি নিয়ে আমাকে উদ্ধার করে আনে। আছির আলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান হামিদা বেগম যখন আমকে তাঁর।


সমস্যার কথা বলে, সাথেসাথেই আমি আমার এক বন্ধুর মাধ্যমে মাধবপুর থানার তেলিয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির সাথে যোগাযোগ করি। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও মুরুব্বিগন এসে তাকে নিয়ে যায়। এব্যাপারে মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) ইকবাল হোসেন জানান, এরকম একটি মামলা হয়েছিল বছরখানেক আগে যা তদন্তের জন্য সিআইডিকে নির্দেশ প্রদান করছেন আদালত। পাল্টা মামলা বা আদালতের কোন নির্দেশ এখনো হাতে পাইনি। আদালতের নির্দেশ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

আশাশুনি সদর ইউনিয়নে বানভাসি মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

আশাশুনি সদর ইউনিয়নে বানভাসি মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ



আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা  প্রতিনিধিঃ আশাশুনি সদর ইউনিয়নের বানভাসি মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করলেন সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক স ম সেলিম রেজা মিলন। বুধবার সকালে নাটানা মোড়ে তিনি এ ত্রাণ বিতরণ করেন। আশাশুনি সদর ইউনিয়নের কমলাপুর,খাসেরাবাদ,দেশারহাটি গ্রামের বানভাসি ২৬০ জনকে জনপ্রতি ১০ কেজি করে জি আর এর চাল বিতরণ করা হয়। ত্রাণ বিতরণ কালে ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, বানভাসি সকল মানুষের কাছে পর্যায়ক্রমে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া হবে। কোথাও কোনো অনিয়ম হলে আপনারা আমাকে জানাবেন আমি তাৎক্ষণিক তার ব্যবস্থা নেব। এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম, ইন্দ্রাণী মণ্ডল প্রমুখ।

আশাশুনিতে এলাকা রক্ষার জন্য রিংবাঁধ নির্মাণের ব্যবস্থা করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান

 আশাশুনিতে এলাকা রক্ষার জন্য রিংবাঁধ নির্মাণের ব্যবস্থা করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান



আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা  প্রতিনিধিঃ

আশাশুনি সদর ইউনিয়নের বানভাসি এলাকা পরিদর্শন শেষে আশাশুনি ও কালিগঞ্জ উপজেলার বেশ কিছু এলাকাকে রক্ষার জন্য কেরানি মোড় থেকে হাড়িভাঙ্গা বাজার পর্যন্ত রিং বাঁধ নির্মাণের ব্যবস্থা করলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এ বি এম মোস্তাকিম। বুধবার দুপুরে বানভাসি এলাকা পরিদর্শন শেষে রিংবাঁধের কাজ তদারকির সময় তিনি বলেন, শ্রীউলা ইউনিয়নের হাজরাখালি বেড়িবাঁধ ভেঙে যাওয়ায় সেখান থেকে প্রবল বেগে প্রবাহিত পানির তোড়ে আশাশুনি সদর ইউনিয়নের তিনটি ওয়ার্ড নতুন করে প্লাবিত হয়েছে। এখন যদি সদর ইউনিয়নের কেরানির মোড় থেকে হাড়িভাঙ্গা বাজার পর্যন্ত রিং বাঁধ দেওয়া না হয় তাহলে সদর ইউনিয়নের  তিনটি ওয়ার্ড, শোভনালী ইউনিয়ন ও কালিগঞ্জ উপজেলার চাম্পাফুল ইউনিয়ন নতুন করে প্লাবিত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে নতুন নতুন এলাকা। এজন্য এই রিং বাঁধটি দেওয়া অত্যন্ত প্রয়োজনীয় বিদায় আমি সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলনসহ সকলের সাথে পরামর্শ করে নতুন রিং বাঁধ নির্মাণের ব্যবস্থা করেছি। তিনি আরও বলেন আমি প্রতিটি দুর্যোগে আপনাদের পাশে থেকে কাজ করেছি আপনারা মনে সাহস রাখুন নিশ্চয়ই একদিন সব বিপদ কেটে যাবে। তিনি উপকূলের জনপদকে রক্ষার লক্ষ্যে টেকসই বেড়ি বাঁধ নির্মাণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক  সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, আওয়ামী লীগ নেতা বুদ্ধদেব সরকার, সমাজসেবক হরিপদ মন্ডল, শংকর সরকার,কেশব মন্ডলসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

আ.লীগের দু’গ্রুপে মারামারির পরে শিবগঞ্জে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

আ.লীগের দু’গ্রুপে মারামারির পরে শিবগঞ্জে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন





শামিম উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌর এলাকায় আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।


আজ বুধবার (২৬ আগস্ট) দুপুরে শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। পরে উভয় পক্ষ পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করে। সংবাদ সম্মেলনে দুই পক্ষ একে অপরকে দোষারোপ করে শাস্তির দাবি জানান।


সংঘর্ষের পর ডাকবাংলোতে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে উপজেলা আওয়ামী লীগ। সেখানে লিখিত বক্তব্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুল ইসলাম টুটুল খাঁন জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গত ২৪ আগস্ট তাকে এবং তাঁর মাকে নিয়ে কুরুচিকর স্ট্যাটাস দেয় নাদিম নামে এক ছাত্রলীগ কর্মী।


এছাড়াও নাদিম মোবাইল ফোনেও একই রকম কথা বলেন। এ ঘটনায় সোমবার রাতে আতিকুল ইসলামের সমর্থকরা নাদিমের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করে এমনটা দাবি করে বুধবার দুপুরে মানববন্ধনে মিলিত হয় কারিবুল হক রাজিনের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের একাংশের নেতাকর্মীরা। এ সময় অপর আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা তাদের ধাওয়া করলে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।’

এর পর পিঠালীতলার নিজ বাড়ীতে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেন মেয়র কারিবুল হক রাজিন। সেখানে তিনি দাবি করেন- কোন রকম উস্কানি ছাড়া টুটুল খানের সমর্থকরা অতর্কিত হামলা চালিয়ে নেতাকর্মীদের আহত করে।


তিনি আরও বলেন, একটি চক্র শান্ত শিবগঞ্জকে অশান্ত করার পাঁয়তারা করছে। তিনি হামলাকারীদের শাস্তির দাবি জানান।

শিবগঞ্জ থানার ওসি শামসুল আলম শাহ জানান, ‘ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। তবে এ ঘটনায় কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।’

ওসি আরও জানান, এ ঘটনায় কোন অভিযোগও পাওয়া যায়নি। তবে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

সিরাজগঞ্জে পাটকল ও পাট চাষীদের রক্ষায় সন্মিলিত নাগরিক পরিষদের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

 সিরাজগঞ্জে পাটকল ও পাট চাষীদের  রক্ষায় সন্মিলিত নাগরিক পরিষদের সমাবেশ অনুষ্ঠিত


মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জে   পাটকল ও পাটচাষীদের রক্ষায়  সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের উদ্যোগে-  এক  সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে 

মঙ্গলবার(২৫আগষ্ট) সকাল১০টার দিকে, - সিরাজগঞ্জ শহরের বাজার ষ্টেশন স্বাধীনতা চত্বরে সমাবেশ জেলা সিপিবি সভাপতি কমরেড ইসমাইল হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত  সমাবেশে বক্তৃতা করেন,  বাম গনতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ও বাসদ নেতা কমরেড বজলুর রশিদ ফিরোজ, সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, রাকসু'র সাবেক ভি,পি জননেতা কমরেড রাগিব

আহসান মুন্না,  

গনতান্ত্রিক বিপ্লবী  জোটের কেন্দ্রীয় সদস্য কমরেড বরকত উল্লাহ, পাট কল রক্ষা সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক কমরেড শহিদুল ইসলাম, জেলা বাসদ আহবায়ক কমরেড নবকুমার কর্মকার, ওয়ার্কার্স পার্টির আহবায়ক কমরেড আবদুর রাজ্জাক, জেলা বাসদ (মাহবুব)  নেতা কমরেড সরোয়ার্দী খান প্রমুখ ।

এ ছাড়াও জেলা সিপিবি সম্পাদক কমরেড শেখ মোস্তফা নুরুল আমিন, সুলতান আহমদ, সহ বাম গনতান্ত্রিক জোটের জেলা নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন ,  করোনাভাইরাস মহামারীতে পূরো দেশের মানুষের জীবন  ও জীবিকা বিপন্ন। ঠিক এ সময়ে  বাংলাদেশের  রাষ্ট্রয়াত্ত্ব  ২৫ টি পাটকল স্থায়ী ও অস্থায়ী মিলে ৫১ হাজার শ্রমিক বেকার করে দিলো এ সরকার  (আওয়ামী লীগ সরকার)। 

এই দুর্যোগে সারা দুনিয়ায় নানা প্রনোদনা দিয়ে মানুষের জীবিকা রক্ষার চেষ্টা চলছে, বাংলাদেশে সেখানে করোনাভাইরাস মহামারীর সুযোগ নিয়ে সোনালি আঁশের ঐতিহ্যবাহী পাটকল বন্ধ করে দিলো। 

বিশ্ব ব্যাপি পাটের সম্ভাবনা যখন বাড়ছে তখন এ সিদ্ধান্ত কার স্বার্থে নেয়া হলো।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, করোনা পরবর্তী বিশ্বব্যাপী পরিবেশ নিয়ে উদবেগ বাড়ার ফলে পাট ও পাটজাত দ্রব্যের চাহিদা বাড়ছে বিপুল ভাবে। সারা ইউরোপে প্লাস্টিক ব্যাগ নিষিদ্ধ হচ্ছে, ফলে ২০২২ সাল নাগাদ শুধু পাটের ব্যাগের চাহিদা দাড়াবে ২৬০ কোটি ডলারের। শুধু আমেরিকায় ১৫ শত কোটি ডলারের চাহিদা বাড়ছে। এই চাহিদার ১০% ভাগ বাজার ধরতে পারলে জুটমিল সংখ্যা বাড়াতে হবে দ্বিগুণ।  

পাটের ব্যবসায় ভারতের কাছে তুলে দিতেই এই ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। 

সরকার পাট শিল্পের লোকশানের দায় শ্রমিক দের কাধে চাপানো চেস্টা করছে। আমরা জোর দিয়ে বলতে চাই, এই দায় সরকারের ভুল নীতি, দুর্নিতী অব্যাবস্থানার জন্য হয়েছে। 

পুজিপতিদের রাক্ষুসী  নজর পরেছে ২৫ টি পাটকলের জমির উপর। ২৬ হাজার কোটি টাকার সম্পদ লুটেরা গোষ্ঠী আত্বসাত করতে চায়৷ সরকারের অনুগত থাকায় লুটেরাদের সেই সুযোগ করে দিচ্ছে আওয়ামী সরকার। 

এর ফলে মারাত্মক ক্ষতি হবে পাটচাষীদের।

৫০ লাখ পাটচাষী, পাটশিল্প,শ্রমিক,, সব মিলিয়ে পরোক্ষ ওপ্রতক্ষভাবে ৪ কোটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তাই যে কোন মুল্যে আন্দোলন করে সরকারের এই দেশদ্রোহী বিশ্বাসঘাতকতাকে প্রতিহত করতে হবে। তার জন্য আগামী ২৯ আগস্ট ঢাকায় জাতীয় কনভেনশন আহবান করা হয়েছে। সেই কনভেনশন থেকে বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসুচী দেওয়া হবে। 

কনভেনশনে যোগদান করার আহবান জানানো হয়।

নাগরপুরে যুবদলের উদ্যোগে শহীদ বাবুর ২৬ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

 নাগরপুরে যুবদলের উদ্যোগে শহীদ বাবুর ২৬ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

 



ডা.এম.এ.মান্নান,টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি:টাঙ্গাইলের নাগরপুরে শহীদ মীর মাহবুবুর রহমান বাবুর ২৬ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে নাগরপুর উপজেলা যুবদলের উদ্যোগে  মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।


আজ বুধবার, ২৬ আগস্ট ২০২০ খ্রি. নাগরপুর সরকারী কলেজ জামে  মসজিদে শহীদ মীর মাহবুবুর রহমান বাবু'র রুহের শান্তি কামনায় দোয়া ও মিলাদ  মাহফিলের আয়োজন করা হয়।


নাগরপুর উপজেলা

জাতীয়তাবাদী যুবদলের আহবায়ক মো.ফনির হোসেন ভুঁইয়ার সভাপতিত্বে সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক দীপন মোল্লার সঞ্চালনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। 


এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম আহবায়ক মিজানুর রহমান লাভলু, নাগরপুর উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি নজরুল ইসলাম, সরকারি কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি জাহিদ হাসান ও নাগরপুর উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠন নেত্রবৃন্দ।


শহীদ মীর মাহবুবুর রহমান বাবুর ছোট ছেলে নাগরপুর সরকারী কলেজ ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মীর খালিদ মাহবুব রাসেল সকলের কাছে বাবার জন্য দোয়া চেয়েছেন।

ঝিনাইদহে জেলা পর্যায়ে সেরা জলবায়ু শিক্ষার্থী পুরস্কার বিতরণ

ঝিনাইদহে জেলা পর্যায়ে সেরা জলবায়ু শিক্ষার্থী পুরস্কার বিতরণ


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান। 

পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় মানুষকে সচেতন করাসহ পরিবেশ রক্ষা আন্দোলনে অবদান রাখায় ঝিনাইদহে জেলা পর্যায়ে সেরা জলবায়ু শিক্ষার্থী পুরস্কার প্রদাণ করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ব্রেড ফর দ্যা ওয়ার্ল্ড এর সহযোগিতায় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে কোস্টাল ডেভলপমেন্ট পার্টনারশিপ (সিডিপি)’র স্ট্রেংদেনিং পিপল’স একশন অন ক্লাইমেট রিক্স রিডকশন এন্ড এনার্জি এফিসিয়েন্সি (স্পেস) প্রকল্প।

জমিলা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুব হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা মাধ্যমিক শিক্ষ অফিসের সহকারি পরিদর্শক মোজাফফর হোসেন পলাশ। । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হোসনে আরা, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সভাপতি এম রায়হান, এনসিআরবি’র সহ-সভাপতি একরামুল কবির, ফজর আলী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী প্রধান শিক্ষক কানু গোপাল মজুমদার, নগর বাথান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক এম এ কাদের। এছাড়াও সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক, শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সিডিপি’র এরিয়া কো-অর্ডিনেটর হাবিবুর রহমান। অনুষ্ঠানে আলোচনা সভা শেষে ১০ জন শিক্ষার্থীকে ও ৩ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জলবায়ু ক্লাব কার্যক্রমে ভূমিকা রাখায় পুরস্কত করা হয়।

নোবিপ্রবিতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

নোবিপ্রবিতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত




 নোবিপ্রবি, প্রতিনিধিঃ নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর 

রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আজ বুধবার (২৬ আগস্ট ২০২০) সকাল ১০ 

টায় বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়াম আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ জসীম উদ্দীনের সঞ্চালনায় 

নোবিপ্রবি কোষাধ্যক্ষ ও জাতীয় দিবস উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফারুক 

উদ্দিনের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ দিদার-উল-আলম। অন্যদের মাঝে সভায় আরো বক্তব্য 

রাখেন নোবিপ্রবি কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন, বিজ্ঞান 

অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সেলিম হোসেন, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নেওয়াজ 

মোহাম্মদ বাহাদুর, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক 

উকিল হলের প্রভোস্ট ও মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ


শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মাজনুর রহমান, অফিসার্স 

এসোসিয়েশনের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন, অফিসার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক 

মেজবাহ উদ্দিন (পলাশ) প্রমুখ । এসময় শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, অফিসার্স এসোসিয়েশনের 

নেতৃবৃন্দসহ ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম বলেন, বাংলাদেশ যতদিন 

থাকবে ততদিন এই পৃথিবীর বুকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম থাকবে। এই নাম কেউ কোন 

দিন মুছে ফেলতে পারবে না। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্ন 

বুনেছিলেন এবং এরই প্রেক্ষিতে ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে আমরা এদেশ পেয়েছি।

পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন

পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধান:পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ, চাকুরিচ্যুত কর্মচারীদের পুনরায় কাজে ফিরিয়ে আনা ও শ্রমিকদের রেশনিং ব্যবস্থা চালুর দাবিতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে।

বুধবার সকালে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সামনে এ কর্মসূচীর আয়োজন করে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ। এতে ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে সংগঠনটির নেতাকর্মীসহ পাটকল শ্রমিকরা অংশ নেয়। এসময় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ জেলা শাখার সভাপতি আব্দুস সালাম শাহ, সাধারণ সম্পাদক মানবেন্দ্র দাস মিন্টু, বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন ফারুক প্রমুখ। কর্মসূচীতে বক্তারা, পাটকল বন্ধের সিন্ধান্ত বাতিল ও শ্রমিক বকেয়া বেতন পরিশোধসহ কয়েক দফা দাবী জানান।

দৌলতপুরে কে সি ভি এন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের উপর সন্ত্রাসী হামলা

 দৌলতপুরে কে সি ভি এন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের উপর সন্ত্রাসী হামলা




কুষ্টিয়া জেলা  প্রতিনিধি//কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার বাগুয়ান  কে, সি, ভি, এন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হালিম টমের উপর সন্ত্রাসী হামালা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার সকালে টম মাস্টার মটোরসাইকেল যোগে যাওয়ার সময় তার গতি রোধ করে, বাগুয়ান মধ্য পাড়া গ্রামের মৃত মসলেম উদ্দিনের ছেলে জিয়াউর রহমান টিটু ও তার ভাই মিজানুর রহমান মিঠু।

গতি রোধ করে কিছু বুঝে উঠার আগে তার উপর হামলা চালায় এবং টম মাস্টারে ডাক চিৎকারে লোক জন ছুটে এলে তারা পালিয়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়েছে এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে হাসপাতালে ভর্তিরত প্রধান শিক্ষক  আব্দুল হালিম টম জানান, টিটু আজ বেশী কিছু দিন যাবত  আমার কাছে এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে আমি দিতে অস্বীকৃতি প্রকাশ করার কারনে আমার উপর এই সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে। 

তিনি আর জানান, ঘটনা স্থান থেকে আমার কাছে থাকা নগদ ৩০ হাজারের অধিক টাকা ও আমার ব্যবহৃত একটি ফ্রিডম ১২৫ সি সি মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয় তারা। 

দৌলতপুর উপজেলা শিক্ষক সমিতির সহ সভাপতি আশরাফুল ইসলাম নান্নু ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচার দাবি করেন। 

এ দিকে দৌলতপুর থানা পুলিশ ঘটনা স্থান পরিদর্শন করেন এবং টিটুর বাড়ীর সামনে থেকে মোটরসাইকেল  উদ্ধার করেন।

এ বিষয়ে টিটুর বাড়ীতে গিয়ে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে এক ঘন্টা সময় অতিবাহিত করলে তার সাথে সাক্ষাত করা সম্ভব হয় নাই। 

এ বিষয়ে হাসপাতালে জরুরী বিভাগে  কর্মরত উপ- সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার সাইফুল ইসলাম জানান, সকাল ৭ টার সময় আব্দুল হালিম ইনজুরি নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

এ বিষয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ জানায়, থানায় এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ হয়েছে তদন্ত করে  আইনানুগ  ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দামুড়হুদার জুড়ানপুরে বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন

দামুড়হুদার জুড়ানপুরে বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন




মোঃকাউসার আলী চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ

"মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার,পুলিশ হবে জনতার" এই স্লোগানকে সামনে রেখে দামুড়হুদা থানার ০১ নং জুড়ানপুর ইউনিয়নে আজ ২৬ শে আগস্ট বুধবার বেলা ১১ টার দিকে উদ্বোধন করা হয় বিট পুলিশিং কার্যক্রমের।এলাকায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ, বাল্য বিবাহ রোধ,নারী নির্যাতন রোধ,ইভটিজিং রোধসহ বিভিন্ন সামাজিক আপরাধ রোধ করার লক্ষ্যে এ বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

এ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র পুলিশ সুপার(দামুড়হুদা সার্কেল) জনাব মোঃআবু রাসেল,দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃআব্দুল খালেক,বিট অফসার এসআই জনাব মোঃআমজাদ হোসেন, ০১ জুড়ানপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জনাব মোঃ সোহরাব হেসেন,ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যবৃন্দ সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন যে এ এলাকার আইন শৃঙ্খলা রক্ষা এবং পুলিশিং সহায়তা সাধারণ মানুষের দোর গোড়ায় পৌছে দেয়া এ বিট পুলিশিং কার্যক্রমের অন্যতম লক্ষ্য।এ এলাকায় বিট পুলিশিং কার্যক্রম উদ্বোধন করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকারকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে।

ই-কমার্স সাইটে নতুন মাত্রা মিরসরাই তরুণ উদ্যোক্তা ফরহাদের ‘মারিয়া গ্লোবাল

ই-কমার্স সাইটে নতুন মাত্রা মিরসরাই তরুণ উদ্যোক্তা ফরহাদের ‘মারিয়া গ্লোবাল




মিরসরাই প্রতিনিধিঃ

গত ১০ বছরে বাংলাদেশ ই-কর্মাস কিংবা অনলাইন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো চাহিদা বেড়েছে ব্যাপক হারে। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে মানুষ ঝুঁকে পড়েছে অনলাইন নির্ভর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর দিকে। তাইতো দারাজ ডট কম, মিনা ডট কম কিংবা অথবা ডটকমের মতো ই-কর্মাস ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর ও কদর বেড়েছে বহুগুণে।


সেই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের ই-কমার্স সাইটে নতুন মাত্রা যোগ করতে মারিয়া গ্রুপের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান মারিয়া গ্লোবাল ডটকম।www.marayaglobal.com

এই সাইটটি ব্যবহার করে মানুষ দেশ-বিদেশের সব ধরনের পণ্য ক্রয় করতে পারবে নিমিষেই। বিশেষ করে ইলেকট্রনিক্স এবং বিদেশি পণ্যগুলোর প্রতি গুরুত্ব দিবে প্রতিষ্ঠানটি। এখনো পর্যন্ত বাংলাদেশসহ পৃথিবীর আরো ৪ টি দেশে এই প্রতিষ্ঠানের শাখা চালু রয়েছে বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির উদ্যোক্তা এবং সি ই ও শেখ ফরহাদ।


শেখ ফরহাদ জানান, গত ৫ বছর ধরে আমরান অনলাইন প্ল্যাটফর্মে ব্যবসা করে আসছি।তবে দুই বছর আগে আমি মারিয়া গ্লোবাল ডটকমের সিদ্ধান্ত নিই, যেটি মারিয়া গ্রুপের একটি প্রতিষ্ঠান। এখনো আমাদের সাইটের কাজ চলমান রয়েছে। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর আমাদের প্রতিষ্ঠান সারা বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরোপুরি কাজ শুরু করবে।


তিনি আরো বলেন, এই সাইটটি ব্যবহার করে সব ধরনের বিদেশি পণ্য সুলভ মূল্য মানুষ যে কোনো পেমেন্ট মেথোডের মাধ্যমে ক্রয় করতে পারবে। এছাড়া কিস্তি এবং ই এম আই পদ্ধতির মাধ্যমে যে কোনো ধরনের পণ্য করা যাবে মারিয়া গ্লোবাল ডটকম থেকে। আমাদের পেজবুক পেজ https://www.facebook.com/marayaglobal.com.bd/ প্রবেশের মাধ্যমে ক্রেতাসাধারণ আরো বিস্তারিত জানতে পারবে।


মারিয়া গ্লোবাল ডটকমে বাংলাদেশে শাখার অফিস ঢাকার মিরপুরে এ অবস্থিত। এখানে প্রায় ৩৮ জন কর্মকর্তা কর্মরত আছেন। এছাড়া বাংলাদেশ ছাড়া বাকি চারটি দেশে আরো ২৫ জন কর্মকর্তা নিয়োগ দিয়েছে এই ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠানটি।


প্রতিষ্ঠানটির উদ্যোক্তা শেখ ফরহাদ চট্টগ্রাম মিরসরাইয়ের সন্তান। তিনি জোরারগঞ্জ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার কলেজের ২০০৬ ব্যাচের ছাত্র। পড়াশোনা শেষ করে সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাড়ি জমিয়ে গড়ে তুলেন নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এরপর গত দুইবছর আগে তিনি মারিয়া গ্লোবাল নামে এই ই-কর্মাস ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলার উদ্যোগ গ্রহণ করেন।


দেশবিরোধীদের মেকি খোলসটা সরিয়ে দিয়ে বঙ্গবন্ধুকন্যার হাতকে শক্তিশালী করুন -রেজাউল করিম চৌধুরী

দেশবিরোধীদের মেকি খোলসটা সরিয়ে দিয়ে বঙ্গবন্ধুকন্যার হাতকে শক্তিশালী করুন -রেজাউল করিম চৌধুরী

রিয়াজুল করিম রিজভী,চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধানঃজাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশ স্বাধীনের পর ডাক ও টেলিযোগাযোগ খাতের যাত্রা শুরু করে দিয়েছিলেন। তারপর বহু সময় পার হলেও দেশের ডাক ও টেলিযোগাযোগ খাত যেভাবে অগ্রসর হওয়ার কথা ছিল  সেভাবে হয়নি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ক্ষমতায় আসার পর ডাক ও টেলিযোগাযোগ খাতে অভাবনীয় সাফল্য স্থাপন করেছেন।


চট্টগ্রাম জিপিও মিলনায়তনে  জাতীয় শ্রমিকলীগের অন্তর্ভুক্ত বাংলাদেশ পোস্টম্যান ও ডাক কমর্চারী ইউনিয়নের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস ও ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার নিহতদের স্বরণে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও চসিক মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী এসব কথা বলেন।



রেজাউল করিম চৌধরী আরো বলেন, প্রচলিত চিঠিপত্র বহনের জন্য যে ডাকব্যবস্থাটি ছিল, সেই নেটওয়ার্কটিকে এখন ডিজিটাল কমার্সের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডাক বিভাগকে চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের উপযোগী এবং ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রসেনা হিসেবে আধুনিকায়নের কাজ করে যাচ্ছেন। ডিজিটাল ব্যবস্থা ছাড়া ভবিষ্যতে কোনো অর্থব্যবস্থা থাকবে না। করোনাকালে ইন্টারনেট, টেলিযোগাযোগ এবং ডাক বিভাগ বাংলাদেশের শ্বাস-প্রশ্বাসের অন্যতম মাধ্যম হয়ে উঠেছে।


তিনি আরো বলেন, প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের জন্য চলার পথ কণ্টকহীন করার লক্ষ্যে দেশবিরোধীদের চেহারার ওপর থেকে মেকি খোলসটা সরিয়ে দিই এবং জনমানুষের সমৃদ্ধি বৃদ্ধির মানসে দুর্নীতিমুক্ত উন্নত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সুশাসন প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুকন্যার হাতকে শক্তিশালী করি।



মোজাম্মেল হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন এ বি এম ফজলুল হক (রিজিওনাল ম্যানেজার ডাক-জীবন বীমা, পূর্বাঞ্চল  চট্টগ্রাম), কাজী মামুনুর রশিদ (অতিরিক্ত পোস্ট মাস্টার জেনারেল, পূর্বাঞ্চল চট্টগ্রাম), মোহাম্মাদ তৈয়ব আলী (ডেপুটি পোস্ট মাস্টার জেনারেল, পূর্বাঞ্চল চট্টগ্রাম), ড. মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন (ঊধ্বতন পোস্ট মাস্টার, চট্টগ্রাম জিপিও), মোহাম্মদ আবদুল্লাহ (ডেপুটি পোস্ট মাস্টার জেনারেল, চট্টগ্রাম বিভাগ), চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক জনাব মোহাম্মদ আবদুল আহাদ।

টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবিতে সাতক্ষীরা নাগরিক কমিটি'র (পাউবো) অফিসের সামনে অবস্থান কর্মসূচি

টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবিতে সাতক্ষীরা নাগরিক কমিটি'র (পাউবো) অফিসের সামনে অবস্থান কর্মসূচি

 


আজহারুল ইসলাম সাদী, জেলা প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরা উপকূলে স্থায়ী টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবিতে সাতক্ষীরা সচেতন নাগরিক কমিটির উদ্যোগে, সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) অফিস এর সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালিত হয়েছে। 


আজ বুধবার (২৬ আগস্ট) বেলা ১১ টার সময় সাতক্ষীরা জেলার আপামর সচেতন নাগরীকরা অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে,  অধ্যক্ষ আনিসুর রহিম এর সভাপতিত্বে ও আলিনুর খান বাবলুর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, প্রফেসর আব্দুল হামিদ, সুধাংশু শেখর সরকার, এড. শেখ আজাদ হোসেন বেলাল, ওবায়দুস সুলতান বাবলু, প্রভাষক ইদ্রিশ আলী, মাধব চন্দ্র দত্ত, এড, মনির উদ্দিন, এড. আল মাহামুদ পলাশ, অপারেশ পাল, শেখ সিদ্দিকুর রহমান, তপন কুমার শীল, সুরেশ পান্ডে, কমরেড আবুল হোসেন, মুনসুর রহমান, কায়সারুজ্জামান হিমেল, কওসার আলী, আব্দুস সামাদ, মমিন হাওলাদার, এড. আবুল কালাম আজাদ এম কামরুজ্জামান প্রমুখ।

কর্মসূচি থেকে আগামী ১ সেপ্টেম্বর সাতক্ষীরা পৌরসভায় অবস্থান কর্মসূচি ও স্মরকলিপি পেশ এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর গণস্বাক্ষর কর্মসূচি সফল করার আহবান জানানো হয়।


কর্মসূচি শেষে, সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ড বিভাগ-১ ও ২ এর নির্বাহী প্রকৌশলীর মাধ্যমে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী বরাবর সাতক্ষীরাসহ উপকূলবাসীর বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে বিভিন্ন দাবী দাওয়া সম্বলিত স্মারকলিপি পেশ করা হয়।


বক্তারা তাদের বক্তব্যে বলেন সাতক্ষীরা উপকূলের ৮০ হাজার মানুষ আজ পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে, পানি উন্নয়ন বোর্ড এর দায় এড়াতে পারেনা? তারা সঠিক ভাবে বরাদ্দনুযায়ী উপকূল এলাকার টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের কাজ না করায়, আজ অসহনীয় মানবেতর জীবনযাপন করছে উপকূলবর্তী, নারী পুরুষ ও শিশু।

বক্তারা এসময় পাউবোর ঠিকাদার দের ও দায়ি করেন।

পানি বন্দি হওয়ার কারণে আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর ও শ্রীউলা ইউনিয়ন, শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ইউনিয়নের কয়েকজন মানুষ মারা গেলেও দুঃখের বিষয় নিজ নিজ কবরস্থান তথা এলাকায়ই তাদের দাফনের ব্যবস্থা করা যাচ্ছে না? 

তাদের দাফন করতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ভিন কোন গ্রামে!


সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্মকর্তাদের গাফিলতির কারনে উপকূলবর্তী এলাকায় বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে তারা আজ নিজের ঘরের চালের নীচে সন্তানদের নিয়ে দাঁড়াতে ও পারছেনা।

কুষ্টিয়ায় গৃহবধু হত্যা মামলায় ১ আসামীর মৃত্যুদন্ড

কুষ্টিয়ায় গৃহবধু হত্যা মামলায় ১ আসামীর মৃত্যুদন্ড

 




কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি //

মোঃ চঞ্চল হোসাইন।

কুষ্টিয়া দৌলতপুর থানার এক গৃহবধু হত্যা মামলায় প্রতিবেশী যুবকের মৃত্যুদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার বেলা সাড়ে ১২টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী জনাকীর্ণ আদালতে পলাতক আসামীর অনুপস্থিতিতে এই রায় ঘোষনা করেন।


দন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী হলেন দৌলতপুর উপজেলার শেহালা গ্রামের মৃত: ছাগরত আলী মোল্ল্যার ছেলে মোঃ কলম মোল্যা ওরফে মোঃ কলম মোল্লা(৩০)।


আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ২৫ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৮টায় ঘটনাস্থল দৌলতপুর উপজেলার শেহালা গ্রামে নিহত গৃহবধু ৩সন্তানের জননী পারুল খাতুন(২৮)কে তার নিজ বাড়ির সামনে রাস্তার উপর জ¦ালানী শুকাতে দেয়ার সময় পূর্ব থেকেই সৃষ্ট শত্রুতার জের ধরে নিকট প্রতিবেশী আসামী কলম মোল্ল্যা ধারালো হাসুয়ার আঘাতে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই গৃহবধু পারুল খাতুনের মৃত্যু হয়। এই এঘটনায় নিহতের পিতা হাবিল শেখ বাদি হয়ে দৌলতপুর থানায় কলম মোল্ল্যা ও তার স্ত্রী লিপি খাতুনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ১৫/১২/২০১৪ তারিখে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন পুলিশ।


কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের কৌশুলী(পিপি) এ্যাড, অনুপ কুমার নন্দী সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দৌলতপুর থানার প্রতিবেশী গৃহবধু পারুল হত্যা মামলার আসামী কলম মোল্ল্যা ঘটনার পর থেকেই পলাতক থেকে বিচার কার্যক্রমের মুখোমুখি হননি। সেই সাথে আসামীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগে চার্জ গঠন পূর্বক দীর্ঘ স্বাক্ষ্য শুনানী শেষে অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমানিত হওয়ায় পেনাল কোড দ:বি ৩০২ধারায় আসামী কলম মোল্লাকে মৃত্যুদন্ডাদেশ দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত। এছাড়া আসামী লিপি খাতুনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমান না হওয়ার তাকে বে-কশুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

কেশবপুরে মাল্টা চাষে সাফল্যর মুখ দেখেছে কৃষক আব্দুস সেলিম

 কেশবপুরে মাল্টা চাষে সাফল্যর মুখ দেখেছে কৃষক আব্দুস সেলিম


মোরশেদ আলম,যশোর প্রতিনিধি:যশোর কেশবপুরে মাল্টা ও কমলা চাষ করে সাফল্যর মুখ দেখেছে আব্দুস সেলিম। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় গাছে বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা অনেকটা বেশি। ইতিমধ্যে অনেক গাছেই মাল্টা ও কমলা ধরেছে।

কিছুদিন গেলেই মাল্টা ও কমলা বিক্রি শুরু হবে। নার্সারী মালিক আব্দুস সেলিমের দীর্ঘ ৪ বছরের শ্রম স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নিতে শুরু করেছে। ২০১৯ সালের ২২ আগস্ট পাথরা গ্রামে মাল্টা বাগানটিতে পরিদর্শন করেছিলেন কেশবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মহাদেব চন্দ্র সানা।

এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মনির হোসেন। সহকারি কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান প্রমুখ।

উপজেলার চুয়াডাঙ্গা গ্রামের মৃত নওয়াব আলী সরদারের ছেলে আব্দুস সেলিম পেশায় একজন নার্সারী ব্যবসায়ী ছিলেন। তিনি ২০১১ সাল থেকে এ পেশার সাথে সম্পৃক্ত।

নিজের জমিসহ অন্যের জমি বর্গা নিয়ে তার নার্সারীর ব্যবসা শুরু করেন। ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার সুবাদে ২০১৬ সালে তার পরিচয় ঘটে মনিরামপুর উপজেলার মুজগুন্নি গ্রামের মাল্টা চাষী আব্দুল করিমের সাথে। তার ক্ষেতের মাল্টার ফলন দেখে তিনি সিদ্ধান্ত নেন মাল্টার আবাদ চাষ করার। তারই অনুপ্রেরণাই ও পদ্ধতিতে ওই বছরই তার ক্ষেত থেকে ৭০ পিচ চারা কিনে এনে তিনি ক্ষেতে রোপণ করে পরিচর্যা শুরু করেন।

নার্সারী মালিক আব্দুস সেলিম জানান, পর পর তিন বছর নার্সারী ব্যবসায় লাভ না হওয়ায় তিনি ভিন্ন কিছু করার সিদ্ধান্ত নিয়ে মাল্টা চাষের পরিকল্পনা গ্রহন করেন। করিম ভাইয়ের দিক নির্দেশনায় তিনি মাল্টা চাষ করে সফল হয়েছেন। তার ক্ষেতের উৎপাদিত চারার কোন রোগ বালাই নেই বললেই চলে। চারা রোপণের পর থেকে নিয়মিত পরিচর্যা করায় ২ বছরের মাথায় প্রতিটি গাছে অসংখ্য মাল্টা ধরেছে। তার ক্ষেতের কমলা সুস্বাদু।

প্রতিটি গাছে ৩‘শ থেকে ৪‘শ পিচ মাল্টা ধরেছে। প্রতি কেজী মাল্টা ১‘শ থেকে ১‘শ ৫০ টাকা কেজী দরে বিক্রি হবে বলে তিনি আশা করছেন। তার নার্সারীতে মাল্টা বারী -১, চায়না কমলা, মাল্টা, ভেরাকাটা মাল্টা, ঝুরি কমলা, নাগপুরি কমলা, ছাতকী কমলাসহ হরেক রকমের ৭ হাজারের মত চারা রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, তিনি শুধু একজন মাল্টা চাষী নন, মাল্টার চাষ সম্প্রসারণেও তিনি ব্যাপকভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তার নার্সারীর উৎপদিত কমলা ও মাল্টার চারা দিয়ে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ৮টি বাগান করতে উৎসাহিত করেছেন।

তার অনুপ্রেরনায় উপজেলার সন্ন্যাসগাছা গ্রামের আবু হুরাইরা, একই গ্রামের মিজানুর রহমান, আব্দুল আজিজ, ভেরচি গ্রামের আরাধন কুন্ডু ও সাতাইশকাটি গ্রামের আক্তার হোসেন মিঠুর কমলা ও মাল্টা বাগান উল্লেখযোগ্য।

তিনি এ আবাদ উপজেলা ব্যাপী সম্প্রসারণেও ব্যাপকভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মহাদেব চন্দ্র সানা বলেন, আবহাওয়া ভালো থাকায় বারী -১ জাতের মাল্টা খুবই উপযোগী।

খেতেও খুব সুস্বাদু। এ জাতের কমলা ও মাল্টা আবাদে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। ভালো ফলন পেতে হলে প্রথমে মাদা করে তার মধ্যে কেঁচো সার, ফসফেট, এমওপি সার প্রয়োগ করার পর চারা রোপণ করতে হবে।

নগরকান্দায় প্রেমিকার বাড়িতে কিশোর প্রেমিক বন্দী

 নগরকান্দায় প্রেমিকার বাড়িতে কিশোর প্রেমিক বন্দী

 




ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলা ফুলসুতী ইউনিয়নের সলিথা গ্রামে ঢাকা থেকে ছুটে আসা কিশোর প্রেমিক এখন কিশোর প্রেমিকার বাড়িতে বন্দী অবস্থায় থাকার অভিযোগ উঠেছে। 

দুই দিন হয় প্রেমিকার বাড়িতে গ্রাম পুলিশের পাহারায় বন্দী হয়ে আছে।সুত্রে জানা যায়,কিশোর প্রেমিক ও কিশোরী প্রেমিকা কে বিয়ে দেওয়ার পায়তারা চালাচ্ছে একটি মহল।এবিষয় নগরকান্দা উপজেলা প্রশাসন এর দৃষ্টি কামনা করছেন এলাকাবাসী।

অবশেষে গ্রেফতার হলো সেই কব্জি কাটা সন্ত্রাসী ও তার এক সহযোগী

অবশেষে গ্রেফতার হলো সেই কব্জি কাটা সন্ত্রাসী ও তার এক সহযোগী





মিঠুন কুমার রাজ, 

স্টাফ রিপোর্টার। 

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় পৌর ছাত্রলীগ নেতা শুভ শীলের (১৮) কব্জি কেটে বিচ্ছিন্ন করার চাঞ্চল্যকর মামলার প্রধান আসামী ছাত্র লীগ নেতা মো. শাকিল আহম্মেদ সাদি (২৫) ও তানভির মল্লিককে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। বুধবার (২৬ আগষ্ট) সকাল ১১টায় মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইন চার্জ আ.জ.ম মাসুদুজ্জামান এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  গ্রেফতারকৃত সাকিল আহম্মেদ সাদি উপজেলার মাছুয়া গ্রামের মো. আইউব আলী খানের ছেলে ও তানভীর মল্লিক (২২) দক্ষিন মিঠাখালী গ্রামের মো. হিরু মল্লিকের ছেলে। মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এস আই মো. শহিদুল ইসলাম জানান, গত মঙ্গলবার (২৫ আগষ্ট) দুপুরে কব্জি কাটা মামলার প্রধান আসামী সাদী ও তানভীর ঢাকার গুলশানের একটি অভিজাত বাড়িতে বাহির থেকে দরজায় তালা দিয়ে আত্মগোপন ছিলো। তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে তাদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে গুলশান থানা পুলিশের সহযোগীতায় তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। আসামীদের বুধবার ২৬আগস্ট আদালতে সোপর্দকরে রিমান্ড আবেদন করা হবে। তিনি আরও জানান, এ মামলার এজাহার নামীয় ছাত্রলীগ কর্মী রাব্বি (২২) ও মৃদুল গয়ালী (২১) কে থানা পুলিশ গত বুধবার ১৯ আগস্ট গ্রেফতার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আ,জ,মো.মাসুদুজ্জামান জানান, স্থানীয় আধিপত্য বিস্তার ও রাজনৈতিক পূর্ব বিরোধ এবং একটি মোবাইল চুরিকে কেন্দ্র করে শুভ শীলের ডান হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন করার ঘটনা ঘটে। তিনি আরও জানান এ মামলার অন্য আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যহত রয়েছে।উল্লেখ্য, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সম্পাদক এ দু’গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গত ১৮ আগষ্ট রাতে পৌর ছাত্রলীগের ৩নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক শুভ শীলের কব্জি কেটে দেয় প্রতিপক্ষ সাদি ও তার দলবল। এ ঘটনায় পরের দিন ১৯ আগস্ট (বুধবার) রাতে উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান মূর্তজা বাদী হয়ে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শরিফুল ইসলাম রাজুসহ ১৮ জনকে নামিয় ও অজ্ঞাত ২০ ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতা-কর্মীদের আসামী করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

বোয়ালখালীতে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন সুমিষ্টা

 বোয়ালখালীতে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন সুমিষ্টা


কাজী মোঃ সাজ্জাদ হাসানঃবোয়ালখালীতে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করলেন সুমিষ্টা রায় (২৭) নামের এক মেয়ে।

উপজেলার সারোয়াতলী ইউনিয়নের খিতাপচর গ্রামের সুমিষ্টা রায় যার বর্তমান নাম ফাহিমা জান্নাত।

তিনি গত বুধবার ১২ ই আগষ্ট সকালে সিনিয়র চীফ জুডিসিয়্যাল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত চট্টগ্রাম কোহিনুর আকতার এর নিকট হাজির হয়ে হলফনামা মূলে সুমিষ্ঠা রায় সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ইসলামি বিধি বিধান মেনে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

হলফনামা অনুযায়ী তার পূর্ববর্তী নাম সুমিষ্টা রায় এর পরিবর্তে বর্তমানে ফাহিমা জান্নাত লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। ইসলাম ধর্মীয় শিক্ষায় অনুপ্রানিত হয়ে সে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার পর ফাহিমা বলেন, আমি “সুমিষ্টা রায়” বর্তমান নাম “ফাহিমা জান্নাত” দয়াময় আল্লাহতায়ালা ও তাঁর মহান রাসুল শেষ নবী সাল্লাল্লাহু আ’লাইহি ওয়াসাল্লামের প্রতি ঈমান আনিয়া ইসলামের মুল নীতি ও প্রকৃত আদর্শ ভিত্তিক জীবন ধারায় আকৃষ্ট হয়ে গত ১২ই আগষ্ট ২০২০ চট্টগ্রাম জেলা আদালতে উপস্হিত থেকে কারো প্ররোচনা ব্যতীত স্বেচ্ছায়, সজ্ঞানে হলফনামা অনুযায়ী পবিত্র কলেমা শরীফ পাঠ করে ধর্ম পরিবর্তন ও নাম পরিবর্তন করলাম।এখন হতে আমি ফাহিমা জান্নাত হিসাবে সবার কাছে পরিচিত হব। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।

শৈলকুপা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদকসহ জেলায় ৩৪ জন করোনায় আক্রান্ত

শৈলকুপা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদকসহ জেলায় ৩৪ জন করোনায় আক্রান্ত


সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা উপজেলার( ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের শৈলকুপা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহিন আক্তার পলাশসহ জেলায় নতুন করে আরও ৩৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ালো ১৫২১ জন। ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন অফিসের করোনা সেলের মুখপাত্র ডা. প্রসেনজিৎ বিশ্বাস পার্থ জানান, বুধবার সকালে কুষ্টিয়া ল্যাব থেকে ঝিনাইদহে ৮৪ টি নমুনার রিপোর্ট এসেছে। এর মধ্যে ৩৪ জনের রিপোর্ট পজেটিভ। শৈলকুপা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক, দৈনিক নবচিত্র ও আমাদের নতুন সময়ের প্রতিনিধি শাহিন আক্তার পলাশ গত ১২ আগষ্ট করোনা উপসর্গ নিয়ে অসুস্থ হয়ে বাসা চিকিৎসাধীন ছিলেন। ২৩ আগষ্ট কুষ্টিয়া ল্যাবে তার নমুনা পরীক্ষা করতে দেওয়া হলে বুধবার (২৬ আগষ্ট) সকালে সাংবাদিক পলাশের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। আক্রান্তদের মধ্যে ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় ৮ জন, কালীগঞ্জ উপজেলায় ১০ জন, শৈলকুপা উপজেলায় ১০ জন,  হরিনাকুন্ডু উপজেলায় ৪ জন এবং কোটচাদপুর উপজেলায় ২ জন রয়েছে। ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন সেলিনা বেগম জানান, জেলায় আক্রান্ত ১৫২১ জনের মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ৯২৮ জন। বুধবার পর্যন্ত ঝিনাইদহ কোভিড-১৯ হাসপাতালে ১৬ জন রোগী ভর্তি আছেন। এছাড়া জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণকারী জেলায় ২১ জনের লাশ দাফন করেছে ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের লাশ দাফন কমিটি।

দিনাজপুরে নানা আয়োজনে পালিত হলো দিনাজপুর ফুলবাড়ী ট্রাজেডি দিবস

 দিনাজপুরে নানা আয়োজনে পালিত হলো দিনাজপুর ফুলবাড়ী ট্রাজেডি দিবস


মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃদিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলায় নানা আয়োজনে আজ বুধবার পালিত হচ্ছে ১৪তম ফুলবাড়ী ট্রাজেডি দিবস।

সকাল থেকেই ছোট-বড় সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে এবং কালোব্যাচ ধারন, শোক র‌্যালী, শহীদ স্মৃতি সৌধে পুষ্পার্ঘ অর্পনের মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করছেন ফুলবাড়ীর সর্বস্তরের জনগন। তবে করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারনে সকল কর্মসূচী স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে পালন করা হচ্ছে। সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠনের ব্যানারে একটি শোকর‌্যালী বের করে ফুলবাড়ীবাসী। র‌্যালীটি শহরের ঢাকা মোড় হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ২০০৬ সালের নিহতদের শহীদ স্মৃতিস্তমে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শহীদ বেদীতে পুস্পার্ঘ অর্পন ও শপথবাক্য পাঠ করানো হয়। শপথবাক্য পাঠে নেতৃত্বদেন ফুলবাড়ী আন্দোলনের নেতা ও ফুলবাড়ী পৌরসভার মেয়র মুরতুজা সরকার মানিক। পরে ফুলবাড়ীবাসীর পক্ষ থেকে ছয় দফা দাবীর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন।

এছাড়াও তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির নেতাকর্মীরা শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলী ও পরে সেখানে একটি প্রতিবাদী সভা অনুষ্ঠিত হয়। 


উল্লেখ্য যে, ২০০৬ সালের ২৬ আগষ্ট। উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা খনি প্রকল্প বাতিল, জাতীয় সম্পদ রক্ষা এবং বিদেশী কোম্পানী এশিয়া এনার্জীকে ফুলবাড়ী থেকে প্রত্যাহারের দাবীতে সকাল থেকেই ফুলবাড়ীর ঢাকা মোড়ে ফুলবাড়ী, বিরামপুর, নবাবগঞ্জ ও পার্বতীপুর উপজেলার হাজার হাজার মানুষ জমায়েত হতে থাকে। দুপুর ২টার দিকে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয়  কমিটি ও ফুলবাড়ী রক্ষা কমিটির নেতৃত্বে বিশাল প্রতিবাদ মিছিল নিমতলা মোড়ের দিকে এগুতে থাকলে প্রথমে পুলিশ বাধা প্রদান করে। পুলিশের বাধা পেয়ে বিশাল মিছিলটি জঙ্গী রূপ নেয়। পুলিশ-বিডিআর-এর বেড়িকেট ভেঙ্গে মিছিলটি এগুতে থাকলে আন্দোলনকারীদের উপর টিয়ার সেল, রাবার বুলেট ও নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করা হয়। বিডিআরের গুলিতে এসময় নিহত হয় আল আমিন, সালেকীন ও তরিকুল। আহত হয় ২ শতাধিক আন্দোলনকারী জনতা। এরপর ফুলবাড়ীবাসী ধর্মঘটের মাধ্যমে এলাকায় অচলাবস্থা সৃষ্টি করে। বাধ্য হয়ে তৎকালীন সরকার ফুলবাড়ীবাসীর সাথে এশিয়া এনার্জিকে দেশ থেকে বহিস্কার, দেশের কোথাও উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলন করা যাবে নাসহ ৬ দফা চুক্তি করলে এলাকাবাসী ধর্মঘট প্রত্যাহার করে।

করোনা ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকের!

 করোনা ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকের!


সুমন হোসেন, যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ

অধ্যাপক পদে আপগ্রেডেশনের সুপারিশ না করলে বিভাগে করোনা ছড়িয়ে দেওয়া হবে বলে হুমকি দিয়েছেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) এক শিক্ষক। বিভাগীয় চেয়ারম্যানকে এই হুমকি প্রদান করেছেন জিন প্রকৌশল ও জৈবপ্রযুক্তি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. নাজমুল হাসান। জিন প্রকৌশল ও জৈবপ্রযুক্তি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. জিয়াউল আমিন রেজিস্ট্রার বরাবর এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগটি প্রকৌশলী মো. আহসান হাবীব ড. নাজমুল হাসানকে অবহিতকরণের জন্য চিঠিও দিয়েছেন রেজিস্ট্রার।



রেজিস্ট্রার দপ্তর কর্তৃক ড. নাজমুল হাসানের কাছে প্রেরিত চিঠিতে জানানো হয়, সহযোগী অধ্যাপক পদে পাঁচ বছর চাকরির অভিজ্ঞতা না থাকায় এবং সংযুক্ত প্রকাশনাসমূহ মানসম্মত না হওয়ায় ড. নাজমুল হাসানকে অধ্যাপক পদে আপগ্রেডেশনের সুপারিশ করা হয়নি। এ ছাড়া ওই শিক্ষক পূর্ববর্তী সময়ের অভিজ্ঞতার সনদ যথাযথভাবে উল্লেখ করেননি বা যে অভিজ্ঞতা উল্লেখ করা হয়েছে, সেগুলো যথাযথ প্রক্রিয়ায় হয়নি। এসব বিষয় নিয়ে বিভাগীয় প্লানিং কমিটি করোনাকালীন কোনো সিদ্ধান্তে উপনীত হতে না পারায় তাঁর বিষয়ে কোনো সুপারিশ করতে পারেনি। পরবর্তী সময়ে করোনা পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হলে আর মিটিং করা সম্ভব না হলে বিভাগে করোনা ছড়িয়ে দেওয়া হবে বলে বিভাগীয় চেয়ারম্যানকে হুমকি প্রদান করেন ড. নাজমুল হাসান।

ড. মো. নাজমুল হাসানের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, করোনা ছড়িয়ে দেওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমার প্রমোশনের জন্য সব নথি প্লানিং কমিটির কাছে পাঠালে বিভাগীয় চেয়ারম্যান অফিস দীর্ঘদিন ধরে তা আটকে রাখে। যেহেতু আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের জিনোম সেন্টারে করোনা পরীক্ষণ দলের সঙ্গে কাজ করি, তাই আমাকে যদি বারবার বিভাগীয় অফিসে যাওয়া-আসা করতে হয় তাহলে ডিপার্টমেন্টে করোনা ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে বারবার তাঁদের অবগত করি। এখন করোনা ছড়িয়ে দেওয়ার মিথ্যা অভিযোগের মাধ্যমে আমার প্রমোশন আটকে দেওয়ার চেষ্টা করছে। আমি যদি এমন কিছু করে থাকি তাহলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আমার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমার বিরুদ্ধে এমন কোনো অভিযোগের বিষয় আমাকে অবহিত করা হয়নি।


এ বিষয়ে মুঠোফোনে জিন প্রকৌশল ও জৈব প্রযুক্তি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. জিয়াউল আমিন জানান, আপনাদের কাছে যে ডকুমেন্ট আছে, সেগুলো কাজে লাগিয়ে কাজ করেন, আমি এ বিষয়ে এখন কিছু বলতে পারব না।



উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন জানান, করোনার বিষয়ে তাঁকে নিয়ে কেউ যেন বিতর্কিত করতে না পারে, সে জন্য অনেক আগেই ড. নাজমুল হাসান করোনা পরীক্ষণ দল থেকে পদত্যাগ করেছেন। আর কারো পক্ষেই উদ্দেশ্যমূলকভাবে করোনা ছড়ানো সম্ভব না, কারণ জিনোম সেন্টার পুরোপুরিভাবে সিসি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রিত। আর শিক্ষক নাজমুল পিসিআর ল্যাবে কাজ করেন। জিনোম সেন্টারের পিসিআর আর ভাইরোলোজি ল্যাব সম্পূর্ণ আলাদা। তাঁর বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা হচ্ছে, ইতিপূর্বে যখন করোনা পরীক্ষা শুরু হয়েছিল, তখনো একদল দুষ্টু লোক কাজকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য এমন মিথ্যাচার করেছে।  

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন শিক্ষক জানান, করোনা পরীক্ষণ দলের সদস্য ড. নাজমুল হাসানকে আপগ্রেডেশন বোর্ডে সুপারিশ না করায় ইচ্ছাকৃতভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি করোনা ছড়িয়ে দিতে পারেন বলে ধারণা করছি। কারণ তিনি করোনা পরীক্ষার সঙ্গে ওতপ্রতোভাবে জড়িত। বিশ্ববিদ্যালয়ে হঠাৎ করে কয়েকজন শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীর করোনাভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হওয়ায় আগামী ২৭ আগস্ট থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

হবিগঞ্জে পাওনা টাকা নিয়ে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন

হবিগঞ্জে পাওনা টাকা নিয়ে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন

লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃহবিগঞ্জের পৌর শহরের অনন্তপুরে পাওনা টাকা নিয়ে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে জাহাঙ্গীর মিয়া (২৬) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত সুমন মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ। পাশাপাশি হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরিটি উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে  হবিগঞ্জ শহরের অন্ততপুর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত জাহাঙ্গীর মিয়া শহরের মোহনপুর এলাকার আব্দুল মন্নাফের ছেলে। বর্তমানে তারা শহরের অনন্তপুর এলাকায় ভাড়া বাসাতে থাকেন।


সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুক আলী জানান পাওনা টাকা নিয়ে জাহাঙ্গীর মিয়া ও সুমন মিয়ার মধ্যে বিরোধ ছিল। এরই জের ধরে বিভিন্ন সময় দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাহাঙ্গীর মিয়াকে একা পেয়ে ছুরিকাঘাত করে সুমন। এ সময় সে গুরুত্বর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে আসেন। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে সিলেট প্রেরণ করেন। সিলেট নিয়ে যাওয়ার পথে সে মারা যায়।


তিনি জানান- এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে সুমন মিয়াকে আটক করেছে। এছাড়া তার কাছ থেকে একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

দৌলতখানের সৈয়দপুরে ব্যাংক এশিয়ার এজেন্ট শাখা উদ্ভোধন

দৌলতখানের সৈয়দপুরে ব্যাংক এশিয়ার এজেন্ট শাখা উদ্ভোধন


মোঃ আওলাদ হোসেন, জেলা প্রতিনিধি,ভোলা (দৌলতখান)

ভোলার দৌলতখান উপজেলার সৈয়দ পুর ইউনিয়নে গুপ্তগন্জ বাজারে গতকাল মজ্ঞল বার ব্যাংক এশিয়ার এজেন্ট শাখার শুভ উদ্ভোধন করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ব্যাংক এশিয়ার  ভোলা জেলা শাখার ম্যানেজার মোঃ মোসলেউদ্দীন,সহকারী ম্যানেজার জয়নুল, সৈয়দপুর ইউনিয়ন পরিষদের সুযোগ্য চেয়ারম্যান জনাব জিএস ভুট্টতালুকদার,একাত্তর বাংলা টেলিভিশনের প্রতিনিধি কাজী জামাল,এশিয়ান টেলিভিশনের প্রতিনিধি মোঃ রোমেনুল ইসলাম সোয়াইব,দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজের জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক উপকূল বার্তার বিশেষ প্রতিনিধি মোঃ আওলাদ হোসেন সহ অনেকে।

এসময় ব্যাংক এশিয়ার গুপ্ত গন্জ শাখার এজেন্ট কর্মকর্তা মোঃ বিল্লাল বলেন, তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ভিশন ২০২০ বাস্তবায়ন করার জন্যেই আমরা এজেন্ট শাখার মাধ্যমে প্রত্যান্ত অঞ্চলের মানুষের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দিতে বদ্ধ পরিকর।

ব্যাংক এশিয়ায় লেনদেনের মাধ্যমে অনেকভাবে লাভবান হওয়া সম্ভব। আমরা চাচ্ছি সর্বোচ্চ টুকু দিয়ে প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের সেবা প্রদান করতে।

উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে ইউপি চেয়ারম্যান জনাব জিএস ভুট্ট তালুকদার বলেন,আমি অত্যন্ত খুশি হয়েছি যে, এরকম একটা প্রত্যন্ত অঞ্চলে এত সুন্দর ও যুগোপযোগী উদ্যোগ নিয়েছে ব্যাংক এশিয়া।আমার দ্বারা সম্ভব এমন সকল সুযোগ প্রদান করবো শাখাটিতে।

পরে স্থানীয় হাফেজ মাওঃ নিজাম উদ্দীনের মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয় অনুষ্ঠান।

প্রকাশ্যে দিবালোকে মেয়েকে ধর্ষনের হুমকি!

প্রকাশ্যে দিবালোকে  মেয়েকে ধর্ষনের হুমকি!




আরিফঃপ্রকাশ্যে দিবালোকে প্যান্ট খুলে একটা মেয়েকে ধর্ষনের হুমকী দিচ্ছে বাবলু নামের এক ছেলে... ঘটনার সময় বাবলুর মা জোসনা এবং বাবলুর ভাই জিতুর স্ত্রী সানজিদা সাথে ছিলো....

.

কিভাবে সম্ভব মা-ভাবী দুইজন মহিলার সামনে আরেকটা মেয়েকে ন্যাংটা হয়ে ধর্ষনের হুমকী দেয়া ?

.

ঘটনাটি পশ্চিম মাদার বাড়ির টং ফকির মাজার লাইনের। ২৯ নং ওয়ার্ড,থানা :- সদর ঘাট, জেলা :- চট্টগ্রাম

.

ঝিকরগাছায় জমি বিক্রয়ের নামে মহাপ্রতারণা,দিশে হারা সংখ্যালঘু পরিবার!

ঝিকরগাছায় জমি বিক্রয়ের নামে মহাপ্রতারণা,দিশে হারা সংখ্যালঘু পরিবার!




নিউজ ডেস্কঃ  যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার ১১নং বাঁকড়া ইউনিয়নের একটি সংখ্যালঘু পরিবারের নিকট জমি বিক্রয়ের ক্রমাগতই প্রতারণা। এই বিষয়ে সংখ্যালঘু পরিবারটি কোন দিশা খুঁজে পাচ্ছে না। সংখ্যালঘু পরিবারটি হল ০৯নং হাজিরবাগ ইউনিয়নের সোনাকুড় গ্রামের একটি সংখ্যালঘু পরিবারের সদস্য বীরেন্দ্রনাথ চৌধুরীর ছেলে শ্রী বিশ্বনাথ চৌধুরী।

বিশ্বনাথ চৌধুরী জানান, ১১নং বাঁকড়া ইউনিয়নের বাঁকড়া গ্রামের মৃত বাবর আলী মোড়লের ছেলে মফিজুর রহমান (৫৫) ও মফিজুর রহমানের ছেলে রোকনুজ্জামান (২৮) তার খুবই পরিচিতি ব্যক্তি। আর পরিচিত হওয়ার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মফিজুর রহমান আমার কাছ থেকে বাঁকড়া মৌজায় ৫ শতক জমি ক্রয় বাবদ ষ্ট্যামে স্বাক্ষর করে ১০ লক্ষ ৫০হাজার টাকা গত ২৭ জুলাই ২০২০ তারিখে। ১২ জুলাই ২০১৯ তারিখ উক্ত জমি রেজিষ্ট্রেরি করে দিবে এবং জনতা ব্যাংক লিমিটেড বাঁকড়া শাখার একটি চেকে ধার হিসাবে ১০ লক্ষ ৫০হাজার টাকা গ্রহন করে। পরবর্তীতে মফিজুর রহমান জমি রেজিষ্ট্রেরি না করে নানা প্রকার তালবাহানা করে।

এমতাবস্থায়  গত ০৫ আগস্ট ২০২০ ইং তারিখ বিকাল অনুমানিক ৩ টার সময় আমার মোবাইল ফোনে মফিজুর রহমান ফোন করিয়া জানায় যে উক্ত ষ্ট্যামটি সঙ্গে নিয়ে তাহার বাড়ীতে গিয়ে টাকা আনতে বলে। তার কথার ভিত্তিতে একই দিন বিকাল সাড়ে ৩টার সময় আমি (বিশ্বনাথ চৌধুরী) সহ আমার স্ত্রী ও সন্তানকে সাথে নিয়ে মফিজুর রহমানের বসত বাড়ীতে গেলে মফিজুর রহমান আমার কাছ থেকে ষ্ট্যামটি নিয়ে ফটোকপি করা কথা বলে তার ছেলে রোকনুজ্জামানের নিকট দেন।

রোকনুজ্জামান ষ্ট্যামে ফটোকপি করার পূর্বে নিজ হাতে ষ্ট্যামের প্রতি পৃষ্ঠার শেষের দিকে ১০এপ্রিল ২০২০ তারিখে ৮ লক্ষ টাকা প্রদান করেছে বলে লিখে নিজেই স্বাক্ষর করে। ষ্ট্যামের পিছনে প্রতারণা পূর্বক ৮ লক্ষ টাকা পরিশোধ দেখিয়া কারণ জানতে চাইলে মফিজুর রহমান ও রোকনুজ্জামান আামাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ সহ বিভিন্ন প্রকার হুমকি-ধমকি দেয়। তবে সে যদি আমাকে ভালো ভাবে আমার পাওনা টাকা ফেরত দেয় তাহলে শেষের পৃষ্ঠায় শুধুমাত্র তার জমা  দেওয়া টাকা ও স্বাক্ষর থাকবে। কিন্তু তার ছেলে সেটা না বুঝতে পেরে ষ্ট্যাম্পের ৫টি পেজেরই তলায় স্বাক্ষর করে দিয়েছে। তাহলে আমি তাদের নিকট পাবো ১০ লক্ষ ৫০হাজার টাকা আর তারা আমাকে কি উক্ত টাকার বিপরীতে ৪০লক্ষ টাকা দিয়েছে ? তারা আমাকে কোন টাকা দেয়নি। তাবে আমি (বিশ্বনাথ চৌধুরী) যে তাদের কাছে টাকা পাবো, সেটা মফিজুর রহমান আমার সামনা সামনি কথা বলার সময় আমি ১ঘন্টা ৫৪ সেকেন্ড রেকোডিং করি সেখানে সব কিছুই তার স্বিকার করেছে সে মামলার ভয়ে এটা করেছে।

মফিজুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি সংবাদকর্মীদের বলেন, আমি তাকে আমার ছেলের মাধ্যমে ৮ লক্ষ টাকা দিয়েছি। আর সে এখন অস্বিকার করছে। সে আদালতে গিয়েছে। আমি আদালতে যাবো। সে যদি আমার নামে পত্রিকায় নিউজ করে তাহলে আমরাও করবো !

বড়বাইশদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে নতুন নেতৃত্ব জাহিদ হাসান পিয়েল আলোচনায়

 বড়বাইশদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে নতুন নেতৃত্ব জাহিদ হাসান পিয়েল আলোচনায়


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরের কোলঘেষে গড়ে ওঠা দ্বীপ পটুয়াখালী জেলার রাঙ্গাবালী উপজেলাধীন ০২ নং বড়বাইশদিয়া ইউনিয়ন। দীর্ঘ ১৮ বছরেও হয়নি ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চন। গত কয়েকমাস আগে মৌডাবি ইউনিয়ন ভাগ হওয়া পর  নিবার্চন হওয়ার কথা থাকলেও দেশে করোনা পরিস্থিতির কারনে সম্ভাব হয়নি।  এ দিকে নিবার্চনের সময় ঘনিয়ে আসার খবর শুনে পটুয়াখালী জেলার রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনের সম্ভাব্য প্রার্থীরা দৌড়-ঝাপ শুরু করেছেন । বিশেষ করে নতুন তরুণ নবীনদের প্রার্থী হওয়ার আগ্রাহ নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মাঝে ব্যাপক সাড়া দেখা গেছে। বাজারে চায়ের দোকান থেকে সবখানেই চলছে নিবার্চনী আলোচনা। দলীয় প্রতিকে নিবার্চন হওয়ার সম্ভাব্য প্রার্থীরা দল থেকে মনোনয়ন নেওয়ার জন্য  নিজ যোগ্যতা যাচাইয়ের জন্য তৎপরতা শুরু করেছেন।  এলাকাবাসীর মতে দলমত নিবিশেষে বড়বাইশদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে তরুন নেতৃত্ব জনাব জাহিদ হাসান পিয়েল কে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে আলোচনা দেখা যাচ্ছে।  জাহিদ হাসান পিয়েল বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নে  টুঙ্গিবাড়ীয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এলাকার জনগনের মধ্যে এসেছে নতুন আলোচনায় । এলাকায় খবর নিয়ে জানা গেছে তার দাদা মৃত আশ্রাব আলী মুফতী স্বাধীনতার পর সতের বছর এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন। পারিবারিকভাবে তারা দাদা সবসময় সাধারণ জনগনের পাশেই ছিলেন।  এ বিষয় জাহিদ হাসান পিয়েল জানান আমার রাজনৈতিক অভিভাবক ১১৪ পটুয়াখালী-০৪ আসনের সংসদ সদস্য জনাব মোঃ মহিব্বুর রহমান (মহিব) এমপি মহোদয়। আর আমার রাজনীতি এলাকার সাধারণ জনগনকে নিয়ে। আসন্ন  ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে আমি চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নিবার্চন করতে চাই যদি দল আমাকে মনোনয়ন দেয়। আমি সরকারের উন্নয়নের ধারা অভ্যাহত রেখে সাধারণ মানুষকে নিয়ে কাজ করতে চাই।

হরিরামপুরে ১২ বছরের স্কুলছাত্রী অপহরণ আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে পরিবার

হরিরামপুরে ১২ বছরের স্কুলছাত্রী অপহরণ আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে পরিবার



আব্দুর রাজ্জাক, হরিরামপুর  প্রতিনিধি  (মানিকগঞ্জ) মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে ক্লাস সিক্সে পড়ুয়া ১২  বছরের স্কুল ছাত্রী রিয়া আক্তারকে অপহরণের অভিযোগে ১সন্তানের জনক রিগ্যান আহমদের (২৫) নামে আজ কোর্টে মামলা করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার। গত ২২ আগষ্ট শনিবার বিকেলে মায়ের সাথে পার্শ্ববর্তী ঝিটকা বাজারে যাওয়ার পথে রাস্তা আটকিয়ে ফিল্মি স্টাইলে টেনে হিছড়ে প্রাইভেট কারে উঠিয়ে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।    


অপহরণকারী রিগ্যান হরিরামপুর উপজেলার বাল্লা ইউনিয়নের দক্ষিণ গোড়াইল গ্রামের মন্টু মিয়ার ছেলে। 


এদিকে অপহরণকারীদের হুমকিতে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে ভুক্তভোগী পরিবার।


ঘটনাটি ঘটেছে হরিরামপুর উপজেলার বাল্লা ইউনিয়নের দক্ষিণ গোড়াইল গ্রামে। অপহৃত রিয়া আক্তার পার্শ্ববর্তী ঝিটকা পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী।


এ ঘটনায় আজ (২৫ আগষ্ট) অপহৃত ছাত্রীর মামা কামাল হোসেন  রিগ্যান ও তার ফুফাতো ভাই আরিফ সহ চারজনের নামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল মানিকগঞ্জ আদালতে মামলা করেছেন। 


জানা গেছে ছোট বেলায় রিয়া আক্তারের বাবা মারা গেলে তার মায়ের অন্যত্র বিবাহ হয়, এরপর থেকে সে মামার বাড়িতেই বসবাস করতে থাকে। 


মামলা ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে আরও জানা যায়, স্কুলে যাওয়া আসার পথে বখাটে রিগ্যান বিভিন্ন প্রকার প্রলোভন এবং কু-প্রস্তাব সহ বিভিন্ন ভাবে ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করতো। পারিবারিকভাবে নিষেধ করেও কাজ হয়নি। বরং এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রিগ্যান ঘটনার দিন পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সহযোগী আরিফ সহ অভিযুক্তদের নিয়ে ছাত্রীকে অপহরণ করে।


এ বিষয়ে অভিযুক্ত রিগ্যানের সাথে মোবাইল ফোন ও সরেজমিনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তা সম্ভব হয়নি। তবে একই গ্রামের আরিফ (৩২)  পিতা হালিম মিয়ার কাছে এবিষয়ে জানতে চাইলে, তিনি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও এবিষয়ে সংবাদ প্রকাশ হলে তিনি এ প্রতিবেদককে তার নিজস্ব আদালতে বিচার ও হাতের আঙুল কেটে নেওয়ার হুমকি দেন।

কোটচাঁদপুর চাউল বাজারে অভিযান, জরিমানা আদায়

কোটচাঁদপুর চাউল বাজারে অভিযান, জরিমানা আদায়

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধানঃ

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর শহরে প্লাস্টিকের বস্তায় চাউল বিক্রি ও লাইসেন্স নবায়ন না করার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে দু’ ব্যবসায়ীকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।


মঙ্গলবার দুপুরে কোটচাঁদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান রিপনের নেতৃত্বে শহরের লক্ষ্মী চাউল ভান্ডারে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ব্যবসায়ী দীপঙ্কর অধিকারীকে প্লাস্টিকের বস্তায় চাউল বিক্রির দায়ে ৪ হাজার টাকা ও মেসার্স একতা ট্রেডার্সের মালিক রতন সাহা কে লাইসেন্স নবায়ন না থাকায় ৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।


পরবর্তীতে ভ্রাম্যমাণ আদালত উভয়ের চাউলের গোডাউনে তল্লাশি চালান। এ সময় খাদ্য পরিদর্শক নাঈমুল হাসান মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ ও উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা আব্দুল আজিজসহ থানা পুলিশের একটি টিম উপস্থিত ছিলেন।

বিমানের আন্তর্জাতিক ফ্লাইট ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থগিত

বিমানের আন্তর্জাতিক ফ্লাইট ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থগিত




মোহাম্মদ বেলাল উদ্দীন সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার: বিমানের আন্তর্জাতিক ফ্লাইট ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালুর তারিখ আরো এক দফায় পিছিয়েছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন এই এয়ারলাইন্সটি। বিমানের ওয়েবসাইটে এক নোটিশের মাধ্যমে আজ(২৬ আগস্ট) এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করা হয়েছে। 


সকল আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ হলেও  দুবাই, লন্ডন ও কুয়ালালামপুর রুটে বিশেষ ফ্লাইট চলাচল অব্যাহত থাকবে।


বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ তাদের ঐ নোটিশে জানিয়েছে, নতুন সিদ্ধান্ত মোতাবেক যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টার, ভারতের কলকাতা, দিল্লি এবং কুয়েত রুটের ফ্লাইট চলাচল আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থগিত থাকবে।


এ ছাড়া বাকি রুটের ফ্লাইটগুলো আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।


শুধু সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই, যুক্তরাজ্যের লন্ডন ও মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর রুটে ফ্লাইট চলাচল অব্যাহত থাকবে।


এদিকে ১৮ আগস্ট থেকে ফ্লাইট চালানোর ঘোষণা দিলেও এখন পর্যন্ত কুয়ালালামপুরের কোনো ফ্লাইট এখনো পরিচালিত হয়নি, এমনকি টিকিট বিক্রিও বন্ধ রয়েছে জানানো হয়।  বলে জানিয়েছে বিমানের সেলস সেন্টার।


উল্লেখ্য যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় গত ২৪ মার্চ সব ধরনের আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ করে দেয়া হইয়েছিল।


এরপর গত ১ জুন থেকে সীমিত পরিসরে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি দেয় বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ।