শৈলকুপায় মরহুম শেখ কামালের নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তি করায় যুকক আটক

শৈলকুপায় মরহুম শেখ কামালের নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তি করায় যুকক আটক



সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা উপজেলা( ঝিনাইদহ) সংবাদদাতাঃ


ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার বারইপাড়া গ্রামে
মরহুম শেখ কামালের নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তি করায় সুজাত হোসেন মোল্যা (২২) নামে এক যুবকে আটক করেছে শৈলকুপা থানা পুলিশ।তার পিতার নাম আইয়ুব হোসেন মোল্যা
সাং- বারইপাড়া শৈলকুপা।

সিনিয়র সাংবাদিক জাহের মিয়া ফকির আর নেই মাধবপুর প্রেসক্লাবের শোক

সিনিয়র সাংবাদিক জাহের মিয়া ফকির আর নেই মাধবপুর প্রেসক্লাবের শোক




লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ
জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও দৈনিক আমাদের অর্থনীতির মাধবপুর প্রতিনিধি জাহের মিয়া ফকির (৭৫) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না………..রাজিউন)। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার পর অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিএমএইচে নেয়া তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে গত কয়েক দিন তাকে হাসপাতালটির নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়। তিনি মাধবপুর উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়নের জালুয়াবাদ গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। সাংবাদিকদের প্রিয়মুখ জাহের মিয়ার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন মাধবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আতিকুর রহমান, সাংবাদিক, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিগণ।

মরহুমের পরিবারের সদস্যরা জানান আগে থেকেই কিছু জটিল শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। মাধবপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি, সেক্রেটারি ও সাংবাদিক লিটন পাঠান এক শোক বার্তায় জানান, তিনি অত্যন্ত মিশুক প্রকৃতির লোক ছিলেন। মাধবপুর গণমাধ্যম জগত তার লেখনির মাধ্যমে অনেক সমৃদ্ধ হয়েছে। তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন ও তার শোক সন্তোপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

মরহুম জাহের মিয়া ফকির ছাত্র জীবনেই ৬নং শাহজাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি ৫ ছেলে ও ১ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মরহুমের জানাজা শুক্রবার সকাল ৯ ঘটিকায় তার নিজ বাড়ি জালুয়াবাদ গ্রামে অনুষ্ঠিত হবে।

ঝিনাইদহ মহেশপুরে একতা ক্লিনিকে প্রসুতির মৃত্যু, ডাক্তার পলাতক

ঝিনাইদহ মহেশপুরে একতা ক্লিনিকে প্রসুতির মৃত্যু, ডাক্তার পলাতক


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 
ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি। 



ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার নেপার মোড়ে একতা ক্লিনিকে লাবনী আক্তার (১৬) নামে এক কিশোরীর মৃত্যু হয়েছে। লাবনী মহেশপুরের সেজিয়া গ্রামের নাঈম হাসানের স্ত্রী। সোহেল রানা নামে এক কথিত চিকিৎসক সিজার করার পরপরই বৃহস্পতিবার সকালে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে লাবনী। নিজেদের অপকর্ম আড়াল করার জন্য লাবনীর মৃত লাশ জীবিত দেখিয়ে টেনে নিয়ে যাওয়া হয় যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এ নিয়ে এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ডাক্তার ও ক্লিনিক মালিক গা ঢাকা দিয়ে আছে। টাকা দিয়ে এই মৃত্যুর ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন ডাঃ সেলিনা বেগম জানিয়েছেন লাবনী মৃত্যুর ঘটনার কারো ছাড় দেওয়ার সুযোগ নেই। আমি বিষয়টি তদন্ত করে রিপোর্ট দিতে বলেছি। নাঈম অভিযোগ করেন বৃহস্পতিবার ভোরে তার স্ত্রীর প্রসব বেদনা শুরু হলে নেপার মোড়ে অবস্থিত মোহন লাল ও তার ছেলে সোহেলের মালিকানাধীন একতা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। এরপর কথিত চিকিৎসক ডাঃ সোহেল রানা লাবনীকে সিজার করেন। সিজারের পর পরই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে লাবনী। এলাকাবাসি জানায় ক্লিনিকটির কোন লাইসেন্স নেই। নেই চিকিৎসার নুন্যতম কোন পরিবেশ। অজ পাড়া গাঁয়ের এই ক্লিনিকে সর্বক্ষন কোন চিকিৎসক থাকে না। নেই কোন প্রশিক্ষিত নার্স। হাসপাতালের মালিক মোহন লাল ওয়ার্ড বয়, মা আয়া ও ছেলে সোহেল ডাক্তার সেজে ক্লিনিকটি পরিচালনা করেন বলে এলাকাবাসির অভিযোগ। এ ব্যাপারে ক্লিনিক মালিক সোহলে ও চিকিৎসক সোহেল রানার বক্তব্য নেওয়ার জন্য তাদের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন ডাঃ সেলিনা বেগম জানান, শুনেছি নেপার বাজারের একতা ক্লিনিকে এক প্রসুতির মৃত্যু হয়েছে। আমি মহেশপুরের স্বাস্থ্য অফিসার ডাঃ আনজুমান আরাকে তদন্ত করে রিপোর্ট দিতে বলেছি। এ বিষয়ে কাউকে ছাড়া দেওয়া হবে না।

আশাশুনিতে জাতীয় শোক দিবস পালনে আ'লীগের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত

আশাশুনিতে জাতীয় শোক দিবস পালনে আ'লীগের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত



আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধিঃ  

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আশাশুনি উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাতক্ষীরা-০৩ আসনের জাতীয় সাংসদ প্রতিনিধি শম্ভুজিত মন্ডল স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা গেছে,

আশাশুনি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ বি এম মোস্তাকিমের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাংসদ প্রতিনিধি শম্ভুজিত মন্ডলের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম মোল্লা, বুদ্ধদেব সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক জগদিশ সানা, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি স ম সেলিম রেজা, যুবলীগ সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি ঢালী মোঃ সামছুল আলম, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি এসএম সাহেব আলী, রনজিত কুমার বৈদ্য, সিরাজুল ইসলাম, বিকাশ মন্ডল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আসমাউল হুসাইন প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে কেন্দ্রীয় ও জেলা কমিটির পত্র মোতাবেক ১৫ আগষ্ট শোক দিবস পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সর্বসম্মতিক্রমে সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী অধ্যাপক ডাঃ আফম রুহুল হক এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মোস্তাকিম ও সাধারণ সম্পাদক ও সাংসদ প্রতিনিধি শম্ভুজিত মণ্ডল ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক নীল কন্ঠ সমকে উপদেষ্টা করে রফিকুল ইসলাম মোল্লাকে আহবায়ক এবং বুদ্ধদেব সরকার, মুজিবর রহমান, জগদীশ চন্দ্র সানা, আব্দুস সামাদ বাচ্চু ও সকল সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে সদস্য করে ১৫ আগস্ট উদযাপন উপলক্ষে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

আলোচনা সভায় ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালনে বিভিন্ন কর্মসূচির সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সকালে জাতীয়, দলীয় পতাকা অর্ধনমিত ও শোক পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, কালোব্যাজ ধারণ ও শোক র্যালি, ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে আলোচনা সভা, বৃক্ষরোপণ, দুপুরে এতিম ও দুস্থদের মাঝে খাদ্য বিতরণ মসজিদে দোয়া, মন্দির ও গির্জায় বিশেষ প্রার্থনা। এছাড়া ৮ আগস্ট বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী পালন, ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলা দিবস পালন এবং ২১আগস্ট নারকীয় গ্রেনেড হামলা দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আলোচনা সভায় করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকল কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসি কে এসি উপহার দিলেন দৌলতপুর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান

কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসি কে এসি উপহার দিলেন দৌলতপুর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান




মোঃ চঞ্চল হোসেন,কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃকুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসির জন্য অত্যাধুনিক এসি উপহার দিয়েছেন কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদ। বৃহস্পতিবার (৬আগষ্ট) বিকাল ৪ টায় কুষ্টিয়া ডিসি কোর্ট প্রেসক্লাব কেপিসির  জন্য এসিটি উপহার হিসেবে প্রদান করা হয়।

সাক্কির আহমেদের পক্ষে  উপহারটি তুলে দেন কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট শরিফ উদ্দিন রিমন এই সময়ে উপস্তিত ছিলেন  দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউল ইসলাম মহি, আদাবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা গোলাম জাকারিয়া।
 উপহার গ্রহণ করেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসির সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব ও

 সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা সহ নাহিদ হাসান তিতাস, মাহমুদ হাসান, তৌফিক তপন, শাহিন রেজা, সুমন,মোঃ চাঁদ আলী, ইউসুফ মাহমুদ,ফিরোজ কায়সার সহ আরো অনেকে। 

  এসময় প্রেসক্লাবের কেপিসির পক্ষ থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দৌলতপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদকে ধন্যবাদ জানান।

নাগরি বর্ণে সিলেটি ভাষা স্বকৃীতি পরিষদের নবীগঞ্জ উপজেলা কমিটি গঠন

নাগরি বর্ণে সিলেটি ভাষা স্বকৃীতি পরিষদের নবীগঞ্জ উপজেলা কমিটি গঠন




নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ 
০৬ আগষ্ট ২০২০ রোজ বৃহস্পতিবার সন্ধা ৬ ঘটিকায় নাগরি বর্ণে সিলেটি ভাষা স্বকৃীতি পরিষদের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

উক্ত কমিটিতে সমন্বয়ক মোঃ নাসির চৌধুরী তানভীর, উপদেষ্টাবৃন্দ হলেন -দিলারা হোসেন, ডাঃ নিজামুল চৌধুরী,নিলুফা আক্তার।

সভাপতি তানিন আহমেদ তাহের, সাধারণ সম্পাদক  মোফাজ্জল ইসলাম  সজীব। 

উক্ত কমিটিতে সহ সভাপতি আজাদ আহমেদ মামুন, মিজান খান, সহ সাধারণ সম্পাদক মাসুদ পারভেজ, সাংগঠনিক সম্পাদক রনি চৌধুরী, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক   হাবিবুর রহমান চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক তাজুল ইসলাম,  ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক   মিফতা উদ্দিন, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির। 


ইউনিয়ন ও পৌরসভার  সমন্বয়কারীবৃন্দ :
নবীগঞ্জ পৌরসভায় যুবরাজ চন্দ্র দে,২ নং পূর্ব ভাকৈইড় ইউনিয়নে রুমেল আহমেদ রুনেল,৪ নং দিঘলবাক  ইউনিয়নে দিদার আহমেদ, ৭ নং করগাও ইউনিয়নে  জেনামুল হক রকি, ৮ নং  নবীগঞ্জ সদর ইউনিয়নে নূরে ফয়সল সাদাফ, ৯ নং বাউসা ইউনিয়নে সাহেদ আহমেদ,১০ নং দেবপাড়া ইউনিয়নে মোঃ আলমগীর হুসাইন, ১২ নং কালিয়ারভাঙ্গা  ইউনিয়নে দেওয়ান আবু সাইদ নাসির।

খুলনার করোনা আপডেট

খুলনার করোনা আপডেট




খুলনা প্রতিনিধিঃ গত ২৪ ঘন্টায় খুলনায় ৩৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে

খুলনা মেডিকেল হাসপাতালের উপাধ্যক্ষ ডাঃ মেহেদী নেওয়াজ জানান,বৃহস্পতিবার খুলনা মেডিকেল কলেজের পিসিআর মেশিনে মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৮১ টি। এরমধ্যে খুলনার নমুনা ১৩৩টি। মোট পজিটিভ আসছে ৯৩টি। 

খুলনা নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৩৯ জন। এছাড়াও সাতক্ষীরায় ৭, বাগেরহাটে ৪৩,  যশোরে ২, ঝিনাইদহে এক ও নড়াইলে ১জন আক্রান্ত হয়েছে।

পিত্ত পাথুরী কি?এবং হোমিও মতে চিকিৎসা

পিত্ত পাথুরী কি?এবং হোমিও মতে  চিকিৎসা




ডা.এম.এ.মান্নান 
------------------------
পিত্ত পাথুরী বা Gall Stone বলতে কোনও কারনবশত পিত্তকোষে বা পিত্তবাহী নালীতে পিত্তরস বেঁধে প্রস্তাব কণার আকার ধারণ করাকে বুঝায়।

কারন:আহারাদির দোষে বা পিত্ত কোষের বা পিত্তনালীর প্রদাহজনিত কারনে এই পিত্ত প্রবাহ  বিঘ্নিত হতে পারে। এর ফলে পিত্তরস জমাট বেঁধে যায় এবং ধীরে ধীরে পিত্ত পাথুরী দেখা দেয়। পিত্ত পাথুরী খুব ছোট হলে অনেক সময় নিজে থেকেই বেরিয়ে যায়। এই পাথুরী যতক্ষণ পিত্তকোষে থাকে তখন ব্যাথা অনুভব হয় আর যখন পিত্তনালীতে আসে তখন প্রচুর ব্যাথা সহ অস্হিরতা হয়ে পড়ে।

 লক্ষন :বমি বমি ভাব হতে পারে। নাভির পাশে ব্যাথা হবে প্রচুর। জন্ধিস হতে পারে। কাধ ও পিঠে বেদনা হবে। মুখে তিক্ত স্বাদ থাকে। পাথর অনেক সময় মলের সংগে ইচ্ছা থাকে না।

হোমিওপ্যাথিক মতে চিকিৎসা:পিত্ত পাথুরী বা Gall Stone এর ভাল চিকিৎসা আছে হোমিওপ্যাথিতে। একজন ভাল রেজিস্টার্ড হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শে মেডিসিন সেবন করলে ইনশাআল্লাহ আরোগ্য সম্ভব।

 পথ্য:পিত্ত পাথুরী রোগী চিকিৎসা কালীন পুষ্টিকর খাদ্য ও তরল খাবার খাওয়া উপকারী এবং ডাবের পানি,ঘোল,ছানার পানি উপকারী। পিত্ত পাথুরী রোগী উগ্র উত্তেজক খাদ্য এবং নেশাপান করা,গুরুপাক খাদ্য  বর্জনীয়।

 লেখক: ম্যানেজিংডাইরেক্টর(এমডি)
মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্র.নাগরপুর, টাংগাইল।

মোহনগঞ্জে দু' পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৯ জন

মোহনগঞ্জে দু' পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৯ জন



আজহারুল ইসলাম মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি নেত্রকোনা।

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে পুর্ব শত্রুতার জেরে দু' পক্ষের সংঘর্ষে নয় জন  আহত হয়েছে,এদের মধ্যে দুই জনের অবস্তা আশংকা জনক হওয়ায় ময়মনসিংহ মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে,বাকীদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (৬আগষ্ট) উপজেলার সমাজ সহিলদেও ইউনিয়নের নিহাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, এই গ্রামের হাবিবুর রহমান কাসেম ও সাবেক ইউঃপিঃচেয়ারম্যান এনামুল হক স্বপনের মধ্যে পুর্ব শত্রুতার জেরে এ সংঘর্ষ বাঁধে, সংঘর্ষে কাসেম সহ তার পক্ষের নয় জন আহত হয়েছে। 

হামলার শিকার কাসেম জানায়, স্বপন চেয়ারম্যানের বাড়ীর সামনে তাদের ফিসারীতে কর্মরত লোকদের জন্য বাচ্চারা খাবার নিয়ে গেলে চেয়ারম্যানের লোকেরা বাচ্চাদেরকে মারধর করে, এ নিয়ে সংঘর্ষ বাধে। 

এ বিষয়ে স্বপন চেয়ারম্যান জানায় তার পক্ষের একটি মেয়েকে বাড়ীর সামনে রাস্তায় কাসেম এর লোকজন আটকায়, খবর পেয়ে লোকজন গেলে সংঘর্ষ বাধে। 

মোহনগঞ্জ থানার ওসি আবদুল  আহাদ খান জানান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে, অভিযোগ ফেলে ব্যাবস্থা নেওয়া হবেও জানান তিনি।

নওগাঁর আত্রাইয়ে সন্ত্রাস জঙ্গীবাদ ও মাদক বিরোধী আলোচনা সভা

নওগাঁর আত্রাইয়ে সন্ত্রাস জঙ্গীবাদ ও মাদক বিরোধী আলোচনা সভা



মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

 নওগাঁর আত্রাইয়ে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, মাদক বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং, নারী ও শিশু নির্যাতন নির্মূলে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে আত্রাই থানার আয়োজনে উপজেলার শাহাগোলা ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শাহাগোলা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এবাদুর রহমান, শাহাগোলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি শামসুল আলম, সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন সন্দেস, প্রধান শিক্ষক মাহাবুবুর রহমান, সাংবাদিক আব্দুল মজিদ মল্লিক, হাফেজ আব্দুস ছালাম, আত্রাই প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক নাজমুল হক নাহিদ, এসআই হাইদার আলী, ইউপি সদস্য আব্দুল মান্নান, মোসলেম উদ্দিনসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন৷

আশাশুনিতে জাতীয় শোক দিবস পালনে আ'লীগের প্রস্তুতিমূলক সভা

আশাশুনিতে জাতীয় শোক দিবস পালনে আ'লীগের প্রস্তুতিমূলক সভা




আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধিঃ

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আশাশুনি উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। আশাশুনি উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মোস্তাকিম এর সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শম্ভু জিৎ মন্ডল এর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম মোল্লা,উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন, দপ্তর সম্পাদক জগদিস সানা, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, সাবেক শিক্ষা ও সাহিত্য সম্পাদক বুদ্ধদেব সরকার, কৃষকলীগের সভাপতি স ম সেলিম রেজা সেলিম, শ্রমিক লীগের সভাপতি ঢালী শামসুল আলম, পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রণজিত কুমার বৈদ্য, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এসএম সাহেব আলি, ছাত্রলীগের সভাপতি আসমাউল হুসাইন। আলোচনা সভা শেষে সর্বসম্মতিক্রমে অধ্যাপক ডাঃআফম রুহুল হক এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মোস্তাকিম ও সাধারণ সম্পাদক শম্ভু জিৎ মণ্ডলকে উপদেষ্টা করে রফিকুল ইসলাম মোল্লাকে আহবায়ক এবং এড. শহিদুল ইসলাম পিন্টু, জগদীশ চন্দ্র সানা, আব্দুস সামাদ বাচ্চু, মুজিবর রহমান, বুদ্ধদেব সরকার, রনজিত কুমার বৈদ্য, আহসানউল্লাহ আছু ও সকল সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কে সদস্য করে ১৫ আগস্ট পালন উপলক্ষে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। আলোচনা সভায় ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালনে বিভিন্ন কর্মসূচির সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় সকালে জাতীয়,দলীয় পতাকা অর্ধনমিত ও শোক পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান,কালোব্যাজ ধারণ ও শোক র্যালি, ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে আলোচনা সভা, বৃক্ষরোপণ, দুপুরে এতিম ও দুস্থদের মাঝে খাদ্য বিতরণ মসজিদে দোয়া, মন্দির  ও গির্জায় বিশেষ প্রার্থনা। এছাড়া ৮ আগস্ট বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী পালন,১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলা দিবস পালন এবং ২১আগস্ট নারকীয় গ্রেনেড হামলা দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।আলোচনা সভায় করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকল কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

শৈলকুপায় করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু-১

শৈলকুপায় করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু-১




সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা উপজেলা( ঝিনাইদহ) সংবাদদাতাঃ

ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার কবিরপুর এলাকায় আজ সন্ধায় বদশা( ৪৫) নামের একজন ব্যাক্তি করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরণ করেছেন।তিনি পেশায় একজন দলিল লেখক ছিলেন। তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।লাশ দাফনের প্রস্তুতি চলছে।

সিরাজগঞ্জ ৫ টি পিকনিকের নৌকাকে অর্থদন্ড

সিরাজগঞ্জ ৫ টি পিকনিকের নৌকাকে  অর্থদন্ড




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধি ঃ সারাদেশে নদীগুলোতে অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধির কারণে দেশের বিভিন্ন জায়গায় নৌকাডুবি হচ্ছে এবং এর ফলে অনেকেই নিখোঁজ হয়েছেন এবং মৃতের সংখ্যাও উল্লেখযোগ্য। গতকালও দেশের বিভিন্ন জায়গায় নৌকাডুবিতে অন্তত ২০ জনের অধিক লোকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে এবং নিখোঁজ হয়েছে অনেকে। 
এমতাবস্থায় নৌকা ভাড়া করে পিকনিক করা করোনাকালীন নির্দেশনার যেমন লংঘন তেমনি নদীর বর্তমান পরিস্থিতিতে ঝুঁকিপূর্ণও বটে। 
আজ সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার রাসেল পার্ক সংলগ্ন যমুনা নদীর তীরে এরকম ০৫ টি নৌকাকে আটক করা হয়। 
নৌ পুলিশ এবং সিরাজগঞ্জ সদর থানা পুলিশের সহযোগিতায় যাত্রীদেরকে তীরে নামিয়ে তাদেরকে সচেতন করা হয় এবং করোনা ও বন্যার এসময়ে পিকনিকের উদ্দেশ্যে নৌকাতে যেন যাত্রী না নেয়া হয় এজন্য নৌকার মাঝিদেরকে সতর্ক করা হয়। 
এসময় সরকারি নির্দেশনা না মানায় দণ্ডবিধি ১৮৬০ অনুযায়ী মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ০৫টি নৌকার মাঝিকে সর্বমোট ১০,০০০/- টাকা অর্থদন্ড দেন সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ।

আশাশুনিতে ভ্রামমান আদালতে পুশকৃত বাগদা চিংড়ি বিনষ্টহ ১৭হাজার টাকা জরিমান আদায়

আশাশুনিতে ভ্রামমান আদালতে পুশকৃত বাগদা চিংড়ি বিনষ্টহ ১৭হাজার টাকা জরিমান আদায়




 আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা   প্রতিনিধি: 

আশাশুনিতে ভ্রাম্যমান আদালতে অবৈধভাবে বাগদা চিংড়ি পুশ করার অপরাধে বাগদা চিংড়ি বিনষ্টসহ ১৭হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শাহীন সুলতানা ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের গোয়ালডাঙ্গা বাজারের ডিপো মালিক গোয়ালডাঙ্গা গ্রামের বসুদেব মজুমদারের পুত্র শংকর মজুমদার এর মাছের ডিপোর ভিতরে অবৈধভাবে বাগদা চিংড়িতে পুশ করার অপরাধে পুশকৃত মাছ জব্দ করে বিনষ্ট করাসহ ৭হাজার টাকা, কাদাকাটি ইউনিয়নের কাটাকাটি বাজারের ভাই ভাই ফিসের মালিক মোঃ আব্দুস সামাদকে অবৈধভাবে মাছ পুশ করার অপরাধে মাছ জব্দসহ ১০হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে তিনি সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, পুশ না করার জন্য সকলই সচেতন হবেন। এ সময় উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, অফিস সহকারি মোস্তাফিজুর রহমান, পুলিশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

শৈলকুপায় বিকাশ প্রতারক গ্রেফতার

শৈলকুপায় বিকাশ প্রতারক গ্রেফতার



সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা উপজেলা( ঝিনাইদহ) সংবাদদাতাঃ

ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার ২নং চাঁদপুর বাজারে বিকাশের টাকা চুরি করতে গিয়ে হাসান( ২৩) নামের জন ধরা পড়েছেন।তার বাড়ি একই উপজেলার দুধসর গ্রামে। আজ সকালের দিকে চাঁদপুর বাজারে আক্তারুলের দোকানে প্রতারণা করতে এসে  তিনি সাধরণ জনগণের হাতে ধরা পড়ে। বিভিন্ন দোকানে হ্যাকিং এর মাধ্যমে টাকা চুরি করেন।এই ঘটনাটি আজ  সকালের দিকে ঘটেছে। সমাজিক ভাবে বিচার করে প্রতারককে আর্থিক জরিমানা করা হয়েছে।

আশাশুনিরপ্রতাপনগরে ৯ টি ওয়ার্ডে ৭০০ পরিবারের মাঝে সুশীলন এর ক্যাশ ও হাইজিন কিটস্ বিতারণ

আশাশুনিরপ্রতাপনগরে ৯ টি ওয়ার্ডে ৭০০ পরিবারের মাঝে সুশীলন এর ক্যাশ ও হাইজিন কিটস্ বিতারণ



আঠিক হসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধিঃ বৃহস্পতিবার দুপুরে আশাশুনির প্রতাপনগরের ৯ টি ওয়ার্ডে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে ৭০০ পরিবারের মাঝে সুশীলন এর বাস্তবায়নে ৭আইটেম হাইজিন কিটস্ প্রদান করা হয়। এছাড়া মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে প্রত্যেক পরিবারকে ৩০০০ টাকা করে প্রদান করা হবে। উপকরণ সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমের উদ্ভোধন করেন ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ জাকির হোসেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সুশীলনের প্রকল্প সমন্বয়কারী নাজমা খাতুন, ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম, কহিনুর ইসলাম বাবু, যুবলীগ সভাপতি আব্দুল বারিক, সুশীলন সংস্থার রুহুল কুদ্দুস, রফিকুল ইসলাম, মাসুদুর রহমান, রুমন জেসমিন, সেলিম রেমা প্রমুখ।

কয়রায় লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের উদ্যোগে আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরন

কয়রায় লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের উদ্যোগে  আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরন



 মোহাঃ ফরহাদ হোসেন কয়রা(খুলনা)প্রতিনিধিঃ লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের উদ্যোগে কয়রার উত্তর বেদকাশি,কয়রা সদর ও মহারাজপুর ইউনিয়নের ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত ৩ শ পরিবারের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে। প্রতি পরিবারের মাঝে প্যাকেজ হিসাবে চাল, ডাল, সয়াবিন, আটা, ডাল, চিনি, আলু, পেয়াজ, সেলাইন, লবন সহ মাস্ক দেওয়া হয়। সার্বিক সহযোগিতা করেন আইসিডির সদস্যরা। গতকাল বৃহস্পতিবার দিন ব্যাপী এ সকল ত্রান সামগ্রী বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের ডিষ্টিক ৩১৫এ -১ বাংলাদেশের গর্ভনর মোঃ নুরুল  ইসলাম শিকদার।


  বিতরন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন লায়ন্স ক্লাবের মোজাম্মেল হক ভুইয়া, মতীন খান, কায়কোবাদ, শরিফুজ্জামান, এম শহিদুজ্জামান রুবেল, শেখ মোঃ শাফায়াত উল্যাহ, ইয়াছমিন আক্তার, মাহফুজুল হক, খুলনা লায়ন্স ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ডাঃ সাহানা রাজ্জাক, সেক্রেটারী কুদরত-ই-খুদা, এম আ্উয়াল রাজ, শামীমা সুলতানা শীলু, কাশিয়াবাদ স্টেশন কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ বাহারাম, সুন্দরবন লায়ন্স ক্লাবের সেক্রেটারী দিলারা নাছরিন শীলা, গালিব কাপাড়িয়া, আইসিডির উপদেষ্টা মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।

করোনা উপসর্গ নিয়ে নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওয়ার্ড আ'লীগ সভাপতি

করোনা উপসর্গ নিয়ে নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওয়ার্ড আ'লীগ সভাপতি



আহসান উল্লাহ বাবলু  উপজেলা প্রতিনিধি   : আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের ০৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি, সাবেক ইউপি সদস্য, গ্রাম্য ডাক্তার নুরুল ইসলাম করোণা উপসর্গ নিয়ে নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

১লা আগস্ট থেকে জ্বর, সর্দি, কাশিসহ করোনাভাইরাসের বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে নৈকাটিস্থ তার নিজ বাসভবনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন তিনি। সাবেক এমপি আলহাজ্ব ডাঃ মোখলেছুর রহমানের পরামর্শক্রমে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন গ্রাম্য ডাক্তার নুরুল ইসলাম।

তার রোগমুক্তির জন্য পরিবার, আত্মীয়-স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষী ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সকলের কাছে দোয়ার অনুরোধ জানান হয়েছে।

সিরাজগঞ্জে নিষিদ্ধ জঙ্গী সদস্য গ্রেফতার!

সিরাজগঞ্জে নিষিদ্ধ জঙ্গী  সদস্য  গ্রেফতার!
 




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃমেহেরপুরের সদর উপজেলায় আমঝুপি ইউপি এর খোকশা শেখপাড়া এলাকায় একটি জঙ্গীবাদ বিরোধী অভিযান চালিয়ে সরকার ঘোষিত নিষিদ্ধ জঙ্গী সংগঠন “ আল্লাহর দল ”র দুইজন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে সিরাজগঞ্জ র‌্যাব-১২। গ্রেফতারকৃতরা হলেন মেহেরপুর সদর উপজেলার খোকসা শেকপাড়া গ্রামের মৃত বাদল শেখের ছেলে মোঃ কামরুল ইসলাম (৩৬) ও মোঃ জিদদার খানের ছেলে মোঃ আরিফুল ইসলাম (৩৩)।
বৃহস্পতিবার (৬ আগষ্ট) সকাল ১১টার দিকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১২ মিডিয়া অফিসার ও সহকারী পুলিশ সুপার মুহাম্মদ মহিউদ্দীন মিরাজ। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়,  গতকাল (৫ আগষ্ট) বিকালে মেহেরপুর সদর উপজেলার ৩নং আমঝুপি ইউপি এর খোকশা শেখপাড়া এলাকায় গোপন  সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১২ জানতে পারে যে, দীর্ঘদিন যাবত গ্রেফতারকৃতরা আল্লাহর দলের সাথে সম্পৃক্ত এবং তারা সদস্য সংখ্যা বাড়ানোর কাজে লিপ্ত আছেন।  এরই প্রেক্ষিতে র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ায় এবং এর সত্যতা পায়। গ্রেফতার  হওয়ার পূর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত তারা মেহেরপুর জেলার আল্লাহর দল নামক সরকার ঘোষিত নিষিদ্ধ জঙ্গী সংগঠন এর সার্বক্ষনিক দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন। তারা নতুন সদস্য সংগ্রহ করেন, দলের জন্য নিয়মিত চাঁদা প্রদান এবং অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে চাঁদা আদায় এর মত গুরুত্ব¡পূর্ন কাজগুলো করতেন। এছাড়াও আল্লাহর দল এর সদস্যদের মধ্যে ভাতৃত্ববোধ বৃদ্ধির লক্ষ্যে তিনি সকল সদস্যদের নিয়ে আলোচনা সভা করতেন। অভিযান পরিচালনাকালীন সময়ে ২ টি উগ্রবাদী বই, ২১ টি উগ্রবাদী লিফলেট , উগ্রবাদী কাজে ব্যবহৃত ৩ টি মোবাইল ফোন, ৫টি সিম উদ্ধার করা হয়।
পরবর্তীতে তাদের বিরুদ্ধে মেহেরপুর জেলার মেহেরপুর সদর থানায় সন্ত্রাস বিরোধী আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ সদরে বন্যায় ও নদী ভাংগনে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঢেউটিন ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

সিরাজগঞ্জ সদরে  বন্যায় ও নদী ভাংগনে  ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঢেউটিন ও  খাদ্য সামগ্রী বিতরণ





মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের উদ্যোগে বন্যায়  নদী ভাংগনে ক্ষতি গ্রস্হদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। 
বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) সকালে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার মিলনায়তনের  সন্মুখ হতে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ অসহায়,  সম্বলহীন, বাস্তুহারা, দরিদ্র ছোনগাছা ইউনিয়নের  ২৮টিপরিবারের মধ্যে  দুইবান করে ঢেউ টিন বিতরণ করা হয়েছে।
 এছাড়াও সয়দাবাদ, কালিয়াহরিপুর, রতনকান্দি, ছোনগাছা, কাওয়াকোলা, খোকসাবাড়ী ও মেছড়া এই সাতটি ইউনিয়নের বানভাসী দুঃস্থ, ৬ হাজার পরিবারের মধ্যে   ৬০ মেট্রিক টন চাউল, ৫৮০ প্যাকেট শুকনো খাবার,    ১২৩ প্যাকেট শিশু খাদ্য এবং ২০০ বস্তা  গো- খাদ্য বিতরণের  প্রধান অতিথি ছিলেন, জেলা প্রশাসক ড.ফারুক আহাম্মদ।  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,  সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রিয়াজউদ্দিন, জেলা ত্রাণ ও পূর্ণবাসন কর্মকর্তা মোঃআব্দুর রহিম, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইসচেয়ারম্যান এস,এম, নাসিম রেজা নূর দিপু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপিকা হাসনা হেনা প্রমুখ ।     
 ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অনুষ্ঠানের  সভাপতিত্ব করেন, সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার সরকার অসীম কুমার।   সার্বিক ব্যবস্থাপনায় উপজেলা দূর্যোগ ও ত্রাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাইদুল হক, অফিস সহকারী মোঃ  রাকিব   সহ অন্যান্য কর্মচারিগণ উপস্থিত ছিলেন ।  
 উল্লেখ্য, ছোনগাছা ইউনিয়নে যমুনানদী ভাংগনে   বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ২৮টি পরিবার  মধ্যে ঢেউ টিন বিতরণকালে অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ সহিদুল আলম, ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ জহুরুল ইসলাম, ইউনিয়ন আঃ লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন

ফলোআপঃ মহেশপুরে সরকারি রাস্তা দখল করে পাঁকা ঘরবাড়ি নির্মাণ, বিপাকে শতাধিক পরিবার

ফলোআপঃ  মহেশপুরে সরকারি রাস্তা দখল করে পাঁকা ঘরবাড়ি নির্মাণ, বিপাকে শতাধিক পরিবার

 খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদাহ জেলা প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহের মহেশপুরে সরকারি রেকর্ডভুক্ত রাস্তা দখল করে পাঁকা ঘরবাড়ি নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে এলাকার কিছু ভূমি দস্যুদের বিরুদ্ধে। যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় প্রায় একশ পরিবার মহা বিপাকে পড়েছে। এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর অভিযোগ দিলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অবৈধ নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়। বর্তমানে তারা পূনরায় বে-আইনীভাবে নির্মান কার্যক্রম শুরু কেরেছে। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার সামন্তা গ্রামের হাশেম স্বর্ণকারের ছেলে সানোয়ার হোসেন ও একই গ্রামের লতিফ ব্যাপারীর ছেলে  কালাম ও আবুল বে-আইনীভাবে ৪৫ নং সামন্তা গোপালপুর মৌজার ৬৩৮নং দাগের উত্তরে ষাটনলপাড়া সরকারি রেকর্ডভুক্ত একটি রাস্তা দখল করে পাঁকা ঘরবাড়ি নির্মান করছে। সরকারি রাস্তায় পাঁকা ঘরবাড়ি নির্মান করায় ঐ এলাকার লোকজনের চলাচলে দারুনভাবে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। 

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী আলী হোসেন, বাবলুর রহমান ও নুরুজ্জামান জানায়, রাস্তার উপরে পাঁকা ঘববাড়ি ও বাথরুম নির্মান করায় বর্তমানে তারা বন্দিদশা জীবনযাপন করছে। তারা আরো জানায়, ইতি মধ্যে মহেশপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) হাফিজ আল আসাদ ঘরবাড়ি নির্মান কাজ বন্ধ করে দিয়েছিল কিন্তু  সরকারী আইন উপক্ষো করে গত বুধবার থেকে পুনরায় ঐ স্থানে ঘরবাড়ি নির্মান শুরু করেছে। 

এ ব্যাপারে মহেশপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) সুজন সরকার জানান, দ্রুতকাজ বন্ধ করার জন্য তাদের কাছে নোটিশ পাঠানো হচ্ছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নির্মান কাজ চলছিল।

মহম্মদপুরে একদিনে ২২ জন করোনা পজিটিভ

মহম্মদপুরে একদিনে ২২ জন করোনা পজিটিভ




মো: কুতুবুল আলম,মহম্মাদপুর(মাগুরা) আজ (৬ আগস্ট)  মহম্মদপুর উপজেলায় একই দিনে ৩৪ জনের নমুনার মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ডাক্তার, পুলিশসহ মোট ২২ জন করোনা পজেটিভ এসেছে। এরমধ্যে নারী ৯ ও পুরুষ ১৩ জন।

মহম্মদপুর সাস্থ্য কমপ্লেক্স- ০৪, বিনোদপুর -০৬, মহম্মদপুর সদর-০৩, শ্যামনগর-০১, ধোয়াইল-০১, হরেকৃষ্ণপুর-০১, গোপালপুর-০২, রোনগর-০২, ঘুল্লিয়া-০২

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা  কর্মকর্তা ডাঃ মোকসেদুল মোমিন বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন।


যশোরে অনিয়মের অভিযোগে বিভিন্ন ক্লিনিকে অভিযান পরিচালনা

যশোরে অনিয়মের অভিযোগে বিভিন্ন ক্লিনিকে অভিযান পরিচালনা




মোরশেদ আলম,যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধিঃযশোরে বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতাল গুলিতে অভিযান চালানো হয়েছে।জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের একটি টিম এ অভিযান চালায়। সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মীর আবু মাউদের নেতৃত্বে অভিযানে অংশ নেয় জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র সার্জারি কনসালটেন্ট ডা. আব্দুর রহিম মোড়ল, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. রেহেনেওয়াজসহ অফিসের দুজন কর্মচারি।
আভিযানিক টিম বুধবার শহরের ৬টি বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালায়। হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার গুলি হচ্ছে শহরের মুজিব সড়কের ল্যাব এইড, নিরালাপট্টির নোভা ডায়াগনস্টিক, জেনারেল হাসপাতালের সামনে অসীম ডায়াগনস্টিক এন্ড ক্লিনিক, দেশ ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক, পপুলার মেডিকেল, ও স্ক্যান হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার।
আভিযানিক টিমটি সবকটি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ল্যাব প্যাথলজিতে অনিয়ম লক্ষ্য করে। ফলে সব গুলি হাসপাতাল, ক্লিনিকের ল্যাব প্যাথলজি সাময়িক ভাবে বন্ধ করে দেয়। বিশেষ করে অনিয়মের শীর্ষে রয়েছে স্ক্যান হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার। এ হাসপাতালের এখানে নিয়মিত কোন ডিউটি ডাক্তার নেই। অন কলে ডাক্তার দিয়ে হাসপাতাল পরিচালনা করা হচ্ছে। প্যাথলজি অপরিচ্ছন্ন। অদক্ষ প্রশিক্ষনহীন টেকনিশিয়ান দ্বারা প্যাথলজি পরিচালিত হয়। পোস্ট অপারেটিভ রুমে এসি নেই। প্রি অপারেটিভ রুম অপরিচ্ছন্ন (অপারেশনের আগে যে রুমে রােগী রাখা হয়)। এসি নেই। এ হাসপাতালে ৩০ বেডের অনুমোদন থাকলেও ডিপ্লোমা পাশ কোন নার্স নেই।
একই অবস্থা পপুলার মেডিকেলের। এখানেও অদক্ষ প্যাথলজিস্ট দিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হচ্ছে। আব্দুল গনি নামে একজন প্যালজিস্ট দিয়ে দায় সারা ভাবে ল্যাব পরিচালনা করা হচ্ছে।
এবিষয়ে জানতে চাওয়া হলে ডা মীর আবু মাউদ বলেন, প্রথম দিনে এদেরকে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে একই অনিয়ম দেখা গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া পরবর্তী নির্দেশ দেয়া না পর্যন্ত সব ল্যাব প্যাথলজি সাময়িক ভাবে বন্ধ থাকবে।


বেকারত্ব দূর করতে ও মাদকদ্রব্যের বিস্তার ঠেকাতে অবৈধ প্রবাসীদের আইনের আওতাভুক্ত করুন

বেকারত্ব দূর করতে ও মাদকদ্রব্যের বিস্তার ঠেকাতে অবৈধ প্রবাসীদের আইনের আওতাভুক্ত করুন



আমাদের অর্থনীতিতে আয়ের বেশ কিছু অর্থ আসে  রেমিটেন্স থেকে। বাংলাদেশের মানুষ যেমন  পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে কাজ করে তাদের কষ্টের উপার্জনের অর্থ আমাদের দেশে পাঠায়, তেমনিভাবে বাংলাদেশ থেকে কাজ করেও অনেক বড় অংকের অর্থ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের লোকজন নিয়ে যায়। শুধু বাংলাদেশ নয় পৃথিবীর সব দেশের কাজ পরিচালনা করার জন্য প্রয়োজন হয় অন্যদেশের লোকের আর এর জন্য তৈরি করা হয় নিদিষ্ট একটি আইনের। যে দেশ  যতটা সফলতার সাথে এই আইনের প্রয়োগ করতে পারে তাড়াই নিশ্চিত করতে পারে সর্বোচ্চ রেমিটেন্স। শুধু কাজের জন্যই কি মানুষ একদেশ থেকে অন্য দেশে পাড়ি জমায়না কেউ আসে লেখাপড়া করতে, কেউ আসে ঘুরতে, কেউ আবার এসে  তাদের ব্যবসায়ীক সম্পর্ক উন্নয়ন করে কেউ বা আসে খেলোয়াড় হিসেবে বিভিন্ন ক্লাবে চুক্তি করে। এভাবেই একদেশের মানুষের অন্যদেশে পাড়ি জমানো। কিন্তু সবাই যে তাদের বৈধ উদেশ্যে হাসিলের বাইরে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয় এটাও আমাদের সবার জানা। সমসাময়িক কিছু ঘটনা দেখলে আমরা আরো বুঝতে পারি কতকটা আইনের প্রয়োগ আছে বাংলাদেশে। এদেশের সাথে  ব্যবসায়ী সম্পর্ক গড়ে তুলতে বিভিন্ন দেশ তৈরি করছে তাদের দেশের শিল্পকারখানা। আর এইসব বিদেশি শিল্পকারখানা গুলোতে আমাদের দেশের লোকের পাশাপাশি কাজ করে যাচ্ছে বাইরের দেশের অনেক লোক। এছাড়াও আমাদের দেশের বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি খাতের  কন্সট্রাকশনের কাজে নিয়োজিত আছে চীন জাপান সহ বিভিন্ন দেশের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। দক্ষ জনশক্তির অভাবে এসব কাজ পরিচালনা করার জন্য বাংলাদেশীয় শ্রমিকদের চাইতে অন্যদেশের শ্রমিকরাই বেশি কাজ করে যাচ্ছে। আর এই কাজ গুলো পরিচালনা করার জন্য বাইরের দেশের শ্রমিক নিয়ে আসতে অনুমতিও দিয়ে যাচ্ছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আর সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে বিদেশি এই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিকেরাও অবৈধভাবে নিয়ে আসছেন তাদের দেশের অবৈধ শ্রমিক। আর তাদের দিয়েই পরিচালনা করা হচ্ছে এসব প্রকল্পের কাজ। এতে করে যেমন আমাদের দেশের অনেক শ্রমিক কাজ না পেয়ে বেকার হয়ে পড়ছে তেমনি বিদেশি এসব অনিবন্ধিত শ্রমিকের মাধ্যমে দেশের অনেক টাকাই চলে যাচ্ছে দেশের বাইরে। আর এইসব টাকার কোন রাজস্বও  আদায় করতে পারছে না সরকার। এছাড়াও বিভিন্ন ক্লাবে খেলার চুক্তি করে সোমালিয়ান এবং নাইজেরীয় অনেক নাগরিক প্রবেশ করে বাংলাদেশে। নিদিষ্ট একটি ক্লাবে তাদের খেলার কথা থাকলেউ বিভিন্ন সময় দেখা যায় তারা আমাদের দেশের বিভিন্ন স্কুল কলেজ উপজেলার টিম গুলোতে অংশগ্রহণ করে থাকে। এতেকরে তারা যেমন বাড়িতে আয়ের সুযোগ পায় তেমনি অল্প টাকায় বিদেশি খেলোয়াড় ও পায় টিম গুলো। কিন্তু ক্ষতির কারণ হল চুক্তিমত এসব খেলার কথা উল্লেখ না থাকায় এই উপার্জিত অর্থ থেকে যেমনি রাজস্ব আদায় করতে পারেনা সরকার তেমনি দেশের মাটিতে গড়ে উঠা নবিন খেলোয়াড়রা ছিটকে পড়ে খেলার মাঠ থেকে। এখব আসি শিক্ষার্থীদের কথায় আমাদের দেশে রয়েছে বেশকিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। এশিয়ান ইউনিভারসিটি ফর উইমেন, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভারসিটি সহ বেশকিছু নামকরা এসব বিশ্ববিদ্যালয় সহ বিভিন্ন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কলারশিপ এর মাধ্যমে পড়েতে আসে বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীরা। বাংলাদেশে পড়াশোনা করার পাশাপাশি অনেক শিক্ষার্থী খুঁজতে থাকে কাজের সন্ধান। আবার অনেকেই কাজ না করতে পেরে জড়িত হয় বিভিন্ন ধরনের মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে আর আমাদের দেশের আইনের কঠোর প্রয়োগ না থাকার কারনে খুব সহজেই তারা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে এসব মাদক পাচার করতে সক্ষম হয়। আর এভাবেই দিনের পর দিন সরকার হারাতে থাকে রাজস্ব আর বাড়তে থাকে বেকারত্ব এবং দেখা দিতে থাকে অর্থনৈতিক মন্দা। বিদেশি এসব নাগরিকের উপর নজরদারি বাড়ানোর পাশাপাশি তালিকাভুক্ত ছাড়া অবৈধভাবে প্রবেশ করা শ্রমিকদের ফেরৎ পাঠানো এবং এই সম্পর্কিত আইনের প্রয়োগই পারে আমাদের দেশের বেকার সমস্যা সমাধান করে অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে।

মোঃ শামীম আল-মামুন
শিক্ষার্থী ব্যবস্থাপনা বিভাগ,
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।

প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ননএমপিও শিক্ষকদের আর্থিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে- কেসিসি মেয়র

 প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ননএমপিও শিক্ষকদের আর্থিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে- কেসিসি মেয়র



মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা   
করোনাকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে ননএমপিও শিক্ষক-শিক্ষিকা-কর্মচারিদের আর্থিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সরকার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিও ভূক্ত এবং জাতীয়করণ করবে। আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার শিক্ষা বান্ধব সরকার। শিক্ষকতাকে চাকরী হিসেবে না দেখে জীবনের ব্রত হিসেবে দেখতে হবে। শিক্ষকরা হচ্ছে মানুষ গড়ার কারিগর। তাই শিক্ষক-শিক্ষিকাদের শিক্ষা বিস্তারে নিবেদিত হতে হবে। ৬ জুলাই বৃহস্পতিবার সকালে মোংলা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে ননএমপিও শিক্ষক-শিক্ষিকা-কর্মচারিদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি কপোর্রেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক একথা বলেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আর্থিক চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাহাত মান্নান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, সহকারি কমিশনার ( ভূমি ) নয়ন কুমার রাজবংশী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন, থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান জসিম। চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার উল কুদ্দুস, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ নাহিদুজ্জামান, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার মোঃ সেলিম, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা এস এম মাসুদ রানা, মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইস্রাফিল হোসেন হাওলাদার, চিলা ইউপি চেয়ারম্যান গাজী আকবর হোসেন, সুন্দরবন ইউপি চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন প্রমূখ। অনুষ্ঠানে স্বতন্ত্র এবতেদায়ী, দাখিল ও আলীম মাদ্রাসার ৬৯জন শিক্ষক-শিক্ষিকা-কর্মচারির মাঝে ৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা চেক বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার এন্ড কমার্স ব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় জেএসসি, এসএসসি এবং এইচএসসিথর জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বৃত্তির নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়। অন্যদিকে প্রধান অতিথি হিসেবে খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক সকাল ১১টায় মোংলা উপজেলা সমাজসেবা অফিসের মাধ্যমে প্রতিবন্ধী শিক্ষা উপবৃত্তির ১১৭জন প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মাঝে ১১ লাখ ৩৯ হাজার টাকার চেক বিতরণ করেন। এছাড়া প্রধান হিসেবে খুলনা সিটি মেয়র মোংলা উপজেলা বিভিন্ন এতিমখানায় জিআর চাল বিতরণ করেন বলে জানা যায়। খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক মোংলা উপজেলা পরিষদ মডেল জামে মসজিদের উন্নয়ন কার্যক্রমসহ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কার্যক্রম সরেজমিন পরিদর্শন করেন।

ওসি প্রদীপ গ্রেফতার

ওসি প্রদীপ গ্রেফতার


 

স্টাফ রিপোর্টার।।
সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় কক্সবাজারের টেকনাফ থানার প্রত্যাহারকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাসকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে র‌্যাব।

র‌্যাবের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, চট্টগ্রাম থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে বলে আমরা শুনেছি। যেহেতু তার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলার তদন্ত সংস্থা আমরা (র‌্যাব), তাই ধারণা করছি তাকে আমাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

 

এর আগে বুধবার রাত ১০টায় টেকনাফ থানায় আদালতের নির্দেশে মেজর সিনহার বোনের করা হত্যা মামলাটি নথিভুক্ত হয়। ওইদিন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৩, টেকনাফের বিজ্ঞ বিচারক তামান্না ফারহার আদালতে অভিযোগ দায়ের করেন সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়া। পরে আদালত সেটি টেকনাফ থানাকে মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করার নির্দেশ দেন। এছাড়া মামলার তদন্তভার দেয়া হয় র‌্যাব-১৫ এর অধিনায়ককে।

মেজর সিনহার বোনের দায়ের করা মামলায় বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইন্সপেক্টর লিয়াকতকে প্রধান আসামি ও টেকনাফ থানার প্রত্যাহারকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাসকে দ্বিতীয় আসামি করে আরও ৯ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়।

 

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) নন্দ দুলাল রক্ষিত, কনস্টেবল সাফানুর করিম, কামাল হোসেন, আব্দুল্লাহ আল মামুন, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) লিটন মিয়া, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) টুটুল ও কনস্টেবল মোহাম্মদ মোস্তফা।

উল্লেখ্য, ৩১ আগস্ট (শুক্রবার) রাত ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।

হাওড়ে বেড়াতে গিয়ে নৌকা ডুবে ১৮ জনের মৃত্যু

হাওড়ে বেড়াতে গিয়ে নৌকা ডুবে ১৮ জনের মৃত্যু
 


আজহারুল ইসলাম মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি নেত্রকোনা
নেত্রকোনার মদনে মিনি কক্সবাজার নামে খ্যাত উচিত পুর পর্যটন কেন্দ্রে বেড়াতে গিয়ে নৌকা ডুবে ১৮ জনের মৃত্যু  হয়েছে। 

বুধবার (৫আগষ্ট)  উচিত পুরের সামনে গোবিন্দ্রশ্রীর রাজালী কান্দা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে একই পরিবারর ৮ জন রয়েছে, নিহতরা হলেন  জুলফা আক্তার (৭) লুবনা আক্তার ১০)  মাহফুজুর রহমান(৪৪) শফিকুর রহনান (৪০) ইশা মিয়া (৪০) আজহারুল (৩৮) মাহমুদ(১২) আসিফ (১৫)জাহিদ (২০) রাকিব (২০) সামাউন (২০) মুজাহিদ (১৭) 
রেজাউল (১৬) হামিদুল (৩৫) যুবায়ের (২২) সাইফুুল (৩০) জহিরুল (৩৫) ও সা আদ (২৫)। 

স্থানীয়রা জানায়, ময়মনসিংহ সদর থানা ও আটপাড়ার তেলিগাতী হতে
একদল মাদ্রাসার
 ছাত্র-শিক্ষক মিলে উচিত পুর পর্যটন কেন্দ্রে বেড়াতে এসে গোবিন্দ্রশ্রী রাজালী কান্দা নামক স্থানে হাওড়ের উত্তাল ঢেউয়ে নৌকাটি ডুবে যায়, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল  ১৮ টি মৃত লাশ উদ্ধার করে,এই সময় ট্রলারে থাকা ৩০ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।
খবর পেয়েই দ্রুত ঘটনা স্থলে ছুটে যান নেত্রকোনা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ আকবর আলী মুনসী ,মদন উপজেলা চেয়ারম্যান বীরমুক্তি যোদ্ধা হাবিবুর রহমান,  মদন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ,মদনের পৌর মেয়র আঃহান্নান শামীম সহ  বিভিন্ন রাজনৈতিক নেত্রীবৃন্দ।

আশাশুনির কুল্যায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন

আশাশুনির কুল্যায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন
 



আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধি  : "মুজিববর্ষের আহ্বান ৩টি করে গাছ লাগান" শ্লোগানকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৩ মাসব্যাপী কর্মসূচির আওতায় আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বিকাল ৫টায় সাতক্ষীরা-০৩ আসনের জাতীয় সাংসদ প্রতিনিধি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শম্ভুজিত মন্ডল এ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। ইউনিয়নের কচুয়া বালিকা বিদ্যালয় চত্বরে এ বৃক্ষ রোপন কর্মসূচির উদ্বোধন পূর্ব আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন এবং কর্মসূচির উদ্বোধন করেন তিনি।

এসময় শম্ভুজিত মন্ডল বলেন, "আমরা অক্সিজেন ছাড়া একটি মিনিটও বাঁচতে পারি না। আর যেহেতু এই অক্সিজেন সরবরাহ করে গাছ সেহেতু আমাদেরকে অবশ্যই গাছ লাগাতে হবে এবং সেগুলোর পরিচর্যা করতে হবে। সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী, আমাদের শ্রদ্ধেয় এমপি স্যারের নির্দেশে আমরা নিজেরাও গাছ লাগাচ্ছি এবং অন্যকে গাছ লাগানো জন্য উদ্বুদ্ধ করে চলেছি"।

আলোচনা সভায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি উজ্জল কুমার ঘোষের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি, আশাশুনি সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ঢালী মোঃ সামছুল আলম, আ'লীগ নেতা এসএম ওমর সাকি পলাশ, কচুয়া বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কে এম আলমগীর মাহমুদ, ইউপি সদস্য আব্দুল গফফার সরদার, আব্দুল আজিজ , আলমগীর হোসেন, প্রতিষ্ঠানের সহকারী শিক্ষক করুণাময় সানা, ব্যবসায়ী অমিত কুমার ঘোষ, এডভোকেট খলিলুর রহমান, আ'লীগ নেতা সাজ্জাদ হোসেন, মৃণাল কান্তি মন্ডল, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু রায়হান, স্থানীয় দীপঙ্কর কুমার ঘোষ, সুশীল ঘোষ বাবুলাল ঘোষ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় স্কুল চত্বরে আমের কলম রোপন ও ৫০ টি বিভিন্ন প্রজাতির আমের কলম বিতরণ করা হয়।

আশাশুনির শালখালী বাজারস্থ ভেঙ্গে যাওয়া কালভার্ট পরিদর্শন করলেন এমপি প্রতিনিধি শম্ভুজিত মন্ডল

আশাশুনির শালখালী বাজারস্থ ভেঙ্গে যাওয়া কালভার্ট পরিদর্শন করলেন এমপি প্রতিনিধি শম্ভুজিত মন্ডল




আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধি ঃ    আশাশুনী উপজেলার শোভনালী ইউনিয়নে শালখালী বাজারস্থ সম্প্রতি ভেঙ্গে   যাওয়়া কালর্ভাট পরিদর্শন করলেন সাতক্ষীরা ০৩ আসনেের জাতীয় সাংসদ প্রতিনিধি ও আশাশুনী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শম্ভুজীত মন্ডল। গতকাল দুপুরে সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী, বিজ্ঞান ও  প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, সাতক্ষীরা ০৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃ আফম রুহুল হক এমপি'র নির্দেশে জরুরী ভিত্তিতে সাধারণ মানুষের যাতায়াতের সুব্যবস্থাথা করনের লক্ষ্যে এ কালভার্টে পরিদর্শনে আসেন তিনি।

এ সময় তিনি উপস্থিত সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা অফিসার ইনচার্জের সাথে ইতিমধ্যেই কালভার্টটি নিয়ে আমার কথা হয়েছে। জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী, উপজেলা প্রকৌশলীকে নিয়ে কালভার্টটি ইষ্টিমেট করে এমপি স্যারর ডিও লেটার দিয়ে ঢাকার প্রেরণ করার ব্যাবস্থা আমি করে ফেলেছি । কালভার্টির ব্যাপারে মুঠোফোনে এমপি স্যারের সাথে দীর্ঘক্ষন কথা হয়েছে আমার। এমপি স্যার উদ্ধোতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেছেন বলে আমাকে আশ্বস্ত করেছেন। মাননীয় এমপি স্যারের সাথে কথা বলার এক পর্যায়ে তিনি আমাকে জানান,  যত দ্রুত সম্ভব কালভার্টটি তৈরী করা হবে এবং যাতায়াতের জন্য বিকল্প রাস্তার ব্যবস্থা করা হবে।

পরিদর্শন কালে উপস্থিত ছিলেন স্থানিয় ইউপি সদস্য উদয়কান্তি বাছাড়, ইউপি সদস্য আব্দুল গফফার, ইউপি সদস্য আব্দুল আজিজ, আওয়ামীলীগ নেতা সাজ্জাত হোসেন, মৃনাল কান্তিসহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃীবৃন্দ।

উল্লেখ্য : কালভার্টটি আশাশুনির এবং দেবহাটা উপজেলার হাজার হাজার মানুষের যাওয়া আসা এবং পণ্য আনা-নেয়া করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছে। বিগত কয়েকদিন থেকে কালভার্টটি ভেঙে পড়ে থাকায় চরম দুর্ভোগের মধ্যে দিনযাপন করছে ওই এলাকার মানুষ ও ব্যবসায়ীরা।

আশাশুনির বেসরকারি ক্লিনিকে তদন্ত অনুষ্ঠিত

আশাশুনির বেসরকারি ক্লিনিকে তদন্ত অনুষ্ঠিত



আহসান  উল্লাহ  বাবলু  উপজেলা প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে অবস্থিত বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনিষ্টিক সেন্টার হালনাগান সংক্রান্ত তদন্ত কার্যক্রম শুরু হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পক্ষ থেকে এ তদন্ত কাজ পরিচালনা করা হচ্ছে। 
উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে চিকিৎসা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে অনেক বে সরকারি ক্লিনিক স্থাপিত হয়েছে। এসব ক্লিনিকে চিকিৎসা সেবা প্রদানে অনিয়ম ও যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন না থাকার অভিযোগ রয়েছে। ইতিমধ্যে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে অনেক ক্লিনিককে সীলগালা ও জরিমানা করাও হয়েছে। ক্লিনিকগুলো সঠিক ভাবে পরিচালনা ও স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমোদন সাপেক্ষে পরিচালনার লক্ষ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স তথ্য সংগ্রহের কাজ করছে। এরই আওতায় বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের হালনাগাদ সংক্রান্ত তদন্ত কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সুদেষ্ণা সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক বুধবার (৫ আগষ্ট) বুধহাটা বাজারে  অবস্থিত ক্লিনিক গুলোতে এ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। কার্যক্রম পরিচালনা করেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্যানিটারী ইন্সপেক্টর জি এম গোলাম মোস্তফা। তদন্ত কার্যক্রমরে পাশাপাশি বিশ্ব মাতৃ দুগ্ধ সপ্তাহের তাৎপর্য জনগণকে অবহিত করণের জন্য ক্লিনিক ও ডায়াগনিস্টিক সেন্টার কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানানো হয়।

আশাশুনির আঃ খালেক করোনামুক্ত

আশাশুনির আঃ খালেক  করোনামুক্ত



আহসান  উল্লাহ  বাবলু  উপজেলা প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিসংখ্যানবিদ (ভারপ্রাপ্ত) আব্দুল খালেক করোনা মুক্ত হয়েছেন। 
স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দায়িত্বকালীন অবস্থায় তার শরীরে করোনা পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়ার পর উপজেলা প্রশাসন তার বাসা লকডাউন ও তাকে হোম কোয়ারিনটাইনে রাখার ব্যবস্থা করেন। বাসাতেই তার চিকিৎসা ও সরকারি সহযোগিতা প্রদান করা হয়। দ্বিতীয় বার নমুনা পরীক্ষার পর তার দেহে করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়া যায়। তিনি করোনা মুক্ত হওয়ায় বুধবার তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান করেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সুদেষ্ণা সরকার। এ সময় মেডিকেল অফিসার ডাঃ মিঠুন বিশ্বাস সহ অন্যান্য অফিস স্টাফ উপস্থিত ছিলেন।

কুল্যার ভাতা বঞ্চিত ভূমিহীন জব্বারের আকুতি মৃত্যুর পর লাশ নদীতে না ভাসানোর

কুল্যার ভাতা বঞ্চিত ভূমিহীন জব্বারের আকুতি  মৃত্যুর পর লাশ নদীতে না ভাসানোর




আহসান  উল্লাহ  বাবলু  উপজেলা প্রতিনিধি ঃ আশাশুনি উপজেলার কুল্যা গ্রামের বৃদ্ধ আঃ জব্বার গৃহহীন, ভূমিহীন হয়েও সরকারি ভাতা বঞ্চিত হয়ে জীবন যাপন করে চলেছেন। তার আকুতি তার মৃত্যুর পর তার মরদেহ যেন নদীতে না ফেলে এক টুকরো জমিতে দাদাফনের ব্যবস্থা করা হয়। 
বৃদ্ধ আব্দুল জব্বার পেশায় একজন শ্রমিক। মাটি কাটা থেকে শুরু করে দো-চালা ঘর নির্মান কাজ করে থাকেন তিনি। বৃদ্ধ আব্দুল জব্বারের বয়স প্রায় ৬৫/৭০ বছর। তিনি কুল্যা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ভোটার। তিনি প্রায় ৩৫ বছর যাবত কুল্যা গ্রামের বিভিন্ন মানুষের বাড়ীর আঙ্গিনায় কুড়ে ঘর বেঁধে বসবাস করছেন। নিজের বলতে এক শতক জমিও নেই তার। তিনি একজন প্রকৃত ভূমিহীন। কিন্তু ভাবতে অবাক লাগে এই অসহায়, ভূমিহীন, বৃদ্ধ লোকটির নামে নেই বয়স্ক ভাতার কার্ড, নেই ভিজিডি কার্ড, নেই ভূমিহীন তালিকায় নাম, এমনকি কয়েক যুগ ধরে মানুষের বাগানে বনবাসী হয়ে অস্থায়ী ভাবে বসবাস করলেও ভাগ্যে মেলেনি এক টুকরো সরকারি জমি বা একটি সরকারি ঘর। বৃদ্ধ আব্দুল জব্বার কান্না বিজড়িত কন্ঠে বলেন, মৃত্যুর আগে আর হয়তো নিজের বলতে কোন জায়গায় স্থায়ী ভাবে ঘর বা সরকারি কোন সুবিধা আমি পাবো না। নিজের বলতে যেহেতু আমার কোন জমি নেই, সেহেতু আমার মৃত্যুর পর আমাকে যেন নদীতে ফেলে দেওয়া না হয়, যেন অবশ্যই মাটিতে দাফন করা হয়। সেটা সরকারি কবরস্থানে হলেও চলবে। কাঁদতে কাঁদতে এমনই হৃদয় বিদারক কথা গুলো বলেন অসহায় আব্দুল জব্বার।

শৈলকুপায় একদিনে রেকর্ড সুস্থ ৪৪, আক্রান্ত-৮

শৈলকুপায় একদিনে রেকর্ড  সুস্থ ৪৪, আক্রান্ত-৮
 



সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা উপজেলা(ঝিনাইদহ) সংবাদদাতাঃ

০৬/০৮/২০২০ তারিখের কোভিড -১৯ এর আপডেট তথ্য ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৮ জন।এবং এক দীনে সুস্থ হয়ছেন সর্বোচ্চ ৪৪ জন।

নতুন আক্রান্ত দের নিজ এলাকাঃ

১.ভুলুন্দিয়া
২.উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স
৩.উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স
৪.উমেদপুর
৫.মধ্যপাড়া
৬.কবিরপুর
৭.কবিরপুর
৮.ফাজিলপুর

মোট আক্রান্তঃ ১১৮+৮=১২৬

মোট সুস্থঃ ৩৯+৪৪=৮৩

মোট মৃত্যুঃ ৪ জন

ঝিনাইদহে আরো ৩৬ জন করোনায় আক্রান্ত

ঝিনাইদহে আরো ৩৬ জন করোনায় আক্রান্ত



সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা উপজেলা(ঝিনাইদহ) সংবাদদাতাঃ


৬_৮_২০২০ইংতারিখের  কোভিড-১৯ এর আপডেট তথ্য :


অফিসিয়াল ভাবে আমাদের কাছে কুষ্টিয়া_ল্যাব  থেকে আরো ৬৬টি_নমুনার_ফলাফল এসেছে যার ৩০জন_নেগেটিভ এবং ৩৬জন_নতুন_আক্রান্ত।এগুলো বিগত ৩/৮/২০২০ ইং এবং ৪/৮/২০২০ ইং তারিখের আংশিক ফলাফল ।এই দুই তারিখের আরো অনেক নমুনার ফলাফল পেন্ডিং আছে।

মোট প্রাপ্ত ফলাফলের ৪১৩৯+৬৬=৪২০৫


নেগেটিভ_৩১৫৩
আক্রান্ত_১০১৬+৩৬=১০৫২

মোট_সংগৃহীত_নমুনার_সংখ্যা_৪৫৬৩

উপজেলা_ভিত্তিক_আক্রান্তের_মোট_সংখ্যা 


সদর_৪৬৯+১৭=৪৮৬
শৈলকূপা_১১৮+৮=১২৬
হরিনাকুন্ডু_৪৩
কালীগন্জ_২৭৯+৬=২৮৫
কোটচাদপুর_৭৩
মহেশপুর_৩৪+৫=৩৯

আক্রান্তদের_এলাকা_সমুহ

সদর_১৭
১.হামদহ
২.ঝিনাইদহ সদর(বিস্তারিত তথ্য নেই)
৩.মদন মোহন পাড়া
৪.তিয়োরদাহ
৫.অগ্নিবীনা সড়ক
৬.পুলিশ লাইন
৭.জেলা কারাগার
৮.ঝিনাইদহ সদর(বিস্তারিত তথ্য নেই)
৯.পাগলা কানাই
১০.উপশহর পাড়া
১১.উপশহর পাড়া
১২.নারায়নপুর
১৩.সাধুহাটি
১৪.উপশহর পাড়া
১৫.তেতুল বাড়িয়া
১৬.মর্ডান পাড়া
১৭.আরাপপুর

শৈলকূপা_৮
১.ভুলুন্দিয়া
২.উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স
৩.উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স
৪.উমেদপুর
৫.মধ্যপাড়া
৬.কবিরপুর
৭.কবিরপুর
৮.ফাজিলপুর

কালীগন্জ_৬
১.একতারপুর
২.আড়পাড়া
৩.আনন্দবাগ
৪.কলেজ পাড়া
৫.কলেজ পাড়া
৬.গোপালপুর, জামাল

মহেশপুর_৫
১.নাটিমা
২.হাবাসপুর
৩.গোপালপুর,হাট যাদবপুর
৪.গোপালপুর,হাট যাদবপুর
৫.ভৈরবা,বাশঁবাড়িয়া

চিকিৎসক_সহ_স্বাস্থ্যকর্মীদের_মোট_আক্রান্তের_সংখ্যা_৬১
চিকিৎসক_সহ_স্বাস্থ্যকর্মীদের_মোট_সুস্থতার_সংখ্যা_২৬

​মোট_সুস্থতার_সংখ্যা_৪৮৭+৪৪+৫২+৩=৫৮৬

উপজেলা_ভিত্তিক_সুস্থতার_সংখ্যা

সদর_২২৬
শৈলকূপা_৩৯+৪৪=৮৩
হরিনাকুন্ডু_২৪
কোটচাঁদপুর_৩৯+৩=৪২
কালীগন্জ_১৩০+৫২=১৮২
মহেশপুর_২৯

কোভিড_১৯_হাসপাতালে_ভর্তি_রোগীর_সংখ্যা_২১

মোট_মৃত্যুর_সংখ্যা_১৭
সদর_৮
শৈলকূপা_৩
কালিগন্জ_৫
কোটচাঁদপুর_১

ফতুল্লা পুকুর থেকে সিএনজিসহ ১ জনের মরদেহ উদ্ধার

ফতুল্লা পুকুর থেকে সিএনজিসহ ১ জনের মরদেহ উদ্ধার



নারায়গাঞ্জর রিপোর্টার,শিপন:
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা কেন্দ্রীয় ঈদগাহ সংলগ্ন পুকুর থেকে সিএনজি চালিত অটোরিকশা সহ এক যুবকের লাশ উদ্ধার করছে পুলিস। দুপুরে ৯৯৯ এ কল পেয়ে পুলিশ গিয়ে আবদুল্লাহ নামের যুবকের লাশ ও সিএনজিটি উদ্ধার করে।আব্দুল্লাহর লাশ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। সে মাসদাইর এলাকার আবু হানিফের ছেলে।

আবদুল্লাহর বাবা আবু হানিফ জানান, ৪ আগস্ট সকাল ১১টায় আব্দুল্লাহকে বকাঝকা করলে সে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। ভোর থেকে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাই।

ফতুল্লা মডেল থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মিনারুল কাজী জানান, ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি স্থানীয়রা পুকুর থেকে এক যুবকের লাশ উঠিয়ে রেখেছে। পুকুর থেকে একটি সিএনজি উদ্ধার করা হয়। যুবকের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। তাই এটা দূর্ঘটনা না হত্যা ময়নাতদন্তের আগে কিছুই বলা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

দিনাজপুরে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে মাংস,মাস্ক বিতরণ

দিনাজপুরে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে মাংস,মাস্ক বিতরণ



মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি॥ সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে এরাইজ হেল্প ফর চাইল্ড ফাউন্ডেশনের উদ্দ্যোগে “আমরা সন্তুষ্টি” দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার ভুষিরন্দর তেতুলিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৫ জন সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে ২ কেজি করে মাংস,মাস্ক বিতরণ ও মেহেদী উৎসব পালন করেছে।
আজ সকালে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মেহেদী পরিয়ে দেয় সংগঠনটির সদস্যরা এসময় আনন্দে মেতে উঠেন ওই শিশুরা।এরপর তাদের মাঝে ২৫ জন সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে ২ কেজি করে গরুর মাংস বিতরণ করেন।ফাউন্ডেশনের সদস্যরা বলেন, মহামারি করোনার কারণে অনেকেই অসহায় হয়ে পড়েছে। বেশি করে সুবিধা বঞ্চিত শিশুগুলো।তাদের কোথায় যেতে পারছেনা,পারছেনা কারো সাথে মেলামেশা করতে তাই আমরা আমাদের এরাইজ হেল্প ফর চাইল্ড ফাউন্ডেশন ও বনলতা চ্যারিটি কেন্ডিফ বিজনেস চেষ্টা করেছি এই শিশুগুলোর আনন্দ ভাগাভাগি করতে।ছোট্র পরিসরে মেহেদী পড়িয়ে ও মাংস বিলিয়ে তাদের মুখে একটু হাসি ফোটাতে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন এরাইজ হেল্প ফর চাইল্ড ফাউন্ডেশনের সভাপতি হাসেম বাধন,প্রেস সেক্রেটারী সাহনাজ রায়হান সাম্মী,ফুট কো-অর্ডিনেটর জিহাদ রহমান সুজন ইসলাম,মাহাদীর,সাকলাইন,জিহাদ,তোফাজ্জল ইসলামসহ ফাউন্ডেশনের অন্যান্য সদস্যরা।

খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ শাখার জরুরী প্রেস বিজ্ঞপ্তি

খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ শাখার জরুরী প্রেস বিজ্ঞপ্তি



প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ 
গতকাল খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন ও সাধারন সম্পাদক এস.এম আসাদুজ্জামান রাসেল এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, 

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ,খুলনা মহানগর শাখার জরুরী সিদ্ধান্ত মোতাবেক জাননো যাচ্ছে যে,সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে খুলনা মহানগরের নামে বেনামে অনেক ভুঁইভোড় সংগঠন কেন্দ্র থেকে মহানগর/বিভিন্ন থানা কমিটি অনুমোদন দিচ্ছে এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই লক্ষ্য করা গেছে যে এদের অধিকাংশই ছাত্রলীগ নেতাকর্মী। তাই খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মীদের অবগতির জন্যে জানানো যাচ্ছে যে,যারা এসব সংগঠনের সাথে যুক্ত আছেন বা ভবিষ্যতে থাকবেন বলে আশাবাদী তারা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ,খুলনা মহানগর শাখা সেচ্ছায় অব্যাহতি নিবেন এবং ছাত্রলীগের সাথে যুক্ত থাকা অবস্থায় অপনি/আপনারা এই ধরনের অন্য কোন সংগঠনে জড়িত থাকতে পারবেন না।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ইতিহাস ঐতিহ্য সংগ্রামের ধারক ও বাহক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠন। তাই বাংলাদেশ ছাত্রলীগ,খুলনা মহানগর শাখার কোন নেতাকর্মী যদি নিজ ইচ্ছায় বা অনিচ্ছায় এইসব ভু্ঁইফোড় সংগঠনে অন্তভুক্ত হয়ে থাকেন তাহলে আগামী ৭ দিনের মধ্যে পদত্যাগ করার সময়সীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হলো এবং নির্দিষ্ট সময়সীমার পরেও কেউ যদি এই ভুঁইফোড় সংগঠনের সাথে জড়িত থাকে তাহলে ভবিষ্যতে সে  আর ছাত্রলীগের কোন পদ-পদবী ব্যবহার করতে পারবেন না।

উল্লেখ্য যে,এসব নামে বেনামে ভুঁইফোড় সংগঠনের সাথে জড়িত কারো অপকর্মের দায়ভার খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ বহন করবে না। সাথে সাথে জাতির পিতার নাম ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নাম সহ তার পরিবারের বিভিন্ন সদস্যের নাম ব্যবহার করে দলীয় অনুমোদনহীন সংগঠনের সাথে জড়িত থেকে বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত তাদের খুজে বের করে দৃষ্টান্তমুলুক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্যে প্রশাসনের নিকট আহবান জানাচ্ছি।

সমস্যা নিয়ে অনলাইন ক্লাসে অংশ নিচ্ছেন জবির ৬০ ভাগ শিক্ষার্থী

সমস্যা নিয়ে অনলাইন ক্লাসে অংশ নিচ্ছেন জবির ৬০ ভাগ শিক্ষার্থী



জবি প্রতিনিধিঃ
দেশের শিক্ষাক্ষেত্রে নতুন সংযোজন অনলাইন ক্লাস। করোনা সংকটের মধ্যেও অনলাইনের সুবাদে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকলেও পাবলিক ও বেসরকারি সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে সমানতালে চলছে ক্লাস। সম্প্রতি “ক্যাম্পাস গুঞ্জন” ফেসবুক পেইজ এবং “জবিয়ান সংকট ও উত্তরণ” গ্রুপ মিলে চালিয়েছে একটি গবেষণা জরিপ। মূলত অনলাইন শিক্ষায় শিক্ষার্থী ও শিক্ষার সার্বিক অবস্থা চিত্রায়ন করতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থরদের নিয়ে জরিপ চালানো হয়। সংশ্লিষ্টরা দাবি, জরিপে প্রাপ্ত তথ্যাদি থেকে তথ্য-প্রযুক্তির বৈষম্য অর্থাৎ ডিজিটাল বৈষম্য বেশ ভালভাবেই প্রমানিত।

ডিজিটাল বৈষম্যের কারণ হিসেবে দেখানো হয়েছে,  প্রথমত ইন্টারনেট সংযোগ না থাকা। ইন্টারনেটের গতির তারতম্য (কোথাও কম, কোথাও বেশি)। দ্বিতীয়ত, সবার কাছে ডিজিটাল ডিভাইস না থাকা। তৃতীয়ত ইন্টারনেট সুলভ না হওয়া।

জরিপে অংশ নেন জবির বিভিন্ন বিভাগের ৩২৪ জন শিক্ষার্থী। অনলাইন ক্লাস কি বর্তমানে সময়োপযোগী পদক্ষেপ বলে মনে করছেন
এতে ২১০ জন শিক্ষার্থীর উত্তর ছিলো হ্যাঁ যা শতকরা ৬৪.৮১% ও না উত্তর দিয়েছেন ১১৪ জন শিক্ষার্থী যা শতকরা ৩৫.১৯%।
দ্বিতীয় প্রশ্ন ছিলো, অনলাইন ক্লাসে অংশগ্রহন করতে আপনার কোন সমস্যা আছে কি?
এখানে হ্যাঁ অর্থাৎ সমস্যা আছে ১৯৭ জনের যা শতকরা ৬০.৮০% ও না অর্থাৎ সমস্যা নেই বলে জানিয়েছেন বাকি ১২৭ জন যা শতকরা ৩৯.২০%।
তৃতীয় প্রশ্ন, অনলাইন ক্লাসের রেকর্ড ভিডিও কি আপনার কোর্স টিচার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক/ইউটিউবে আপলোড করে? এখানে হ্যাঁ অর্থাৎ করে বলে জানিয়েছেন ১২৯ জন শিক্ষার্থী যা শতকরা ৩৯.৮১% আর না অর্থাৎ করে না বলে জানিয়েছেন ১৯৫ জন শিক্ষার্থী যা শতকরা ৬০.১৯%। 
চতুর্থ প্রশ্ন, অনলাইন ক্লাসে অংশগ্রহন করতে আপনার প্রতিবন্ধকতা কোনটি/কোনগুলি?
এখানে ,প্রয়োজনীয় ডিভাইস নেই ৫০ জনের বা ১৫.৪৩% এর, পর্যাপ্ত ডেটার অভাব ১৮৩ জনের বা ৫৬.৪৯% এর,নেটওয়ার্ক সমস্যা ১৯৫ জনের বা ৬০.১৯% এর। কোন সমস্যা নেই ৫০ জনের বা ১৫.৪৩% এর। প্রয়োজনীয় ডিভাইস নেই এবং পর্যাপ্ত ডেটার অভাব ৬ জনের বা ১.৮৫% এর।
প্রয়োজনীয় ডিভাইস নেই এবং নেটওয়ার্ক সমস্যা ৫ জনের বা ১.৫৪% এর। পর্যাপ্ত ডেটার অভাব এবং নেটওয়ার্ক সমস্যা ৯০ জনের বা ২৭.৭৮% এর। পর্যাপ্ত ডেটার অভাব, প্রয়োজনীয় ডিভাইস নেই এবং নেটওয়ার্ক সমস্যা ২৩ জনের বা ৭.১০% এর।
পঞ্চম প্রশ্নটি ছিলো, অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমকে সকল শিক্ষার্থীর জন্য সহজলভ্য করতে কি কি পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে?
এখানে শিক্ষার্থীদের মতামত থেকে কিছু বিষয় সামনে উঠে এসেছে যেমন, ডেটা প্যাক প্রদান করা, ক্লাসের রেকর্ডেড ভিডিও’র পাশাপাশি পিডিএফ ফাইল প্রদান করা, সপ্তাহে ক্লাস নির্দিষ্ট ৩ দিনে নিয়ে আসা, এতে প্যাকেজ নিতে সুবিধা হবে, অর্থসংকটে যেসব শিক্ষার্থী ডিভাইস কিনতে পারেনি তাঁদের জন্য ডিভাইসের ব্যবস্থা করা, সিম কোম্পানিগুলোর সাথে চুক্তিতে আসা, এতে করে শিক্ষার্থীরা সুলভ মূল্যে ইন্টারনেট সেবা পাবে।

জবি ফিচার রাইটার্স গ্রুপের ঈদ আয়োজন "ফেলে আসা ঈদ আনন্দ"

জবি ফিচার রাইটার্স গ্রুপের ঈদ আয়োজন "ফেলে আসা ঈদ আনন্দ"




জবি প্রতিনিধিঃ ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ফিচার রাইটার্স ফেইসবুক গ্রুপের আয়োজনে জবি শিক্ষার্থীদের জন্য "ফেলে আসা ঈদ আনন্দ" নামে এক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়ে। উক্ত প্রতিযোগীতায় একজন প্রতিযোগী তার জীবনে অতীতে ফেলে আসা ঈদের দিনগুলোর স্মৃতিচারণ করে তার  নিজের মত করে বিভিন্ন ধরণের সৃজনশীল কাজের মাধ্যমে শেয়ার করতে পারবেন।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিজেদের স্ব-রচিত কবিতা, ছোটগল্প অথবা উন্মুক্ত লেখার (ফিচার) মাধ্যমে এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। ৫ আগষ্ট থেকে ১০ আগষ্ট ৫ দিন ব্যাপী এই প্রতিযোগীতা সকল জবিয়ানদের জন্যে উন্মুক্ত এবং পুরষ্কার হিসেবে প্রতিটি বিষয়ে সেরা একজন বিজয়ীকে দেয়া হবে ঈদ সালামী এবং প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারীর জন্য রয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ফিচার রাইটার্স গ্রুপের পক্ষ থেকে সার্টিফিকেট। পুরো প্রতিযোগীতার সেরা গল্পটি প্রকাশিত হবে দেশসেরা জাতীয় দৈনিক পত্রিকায়।

একজন প্রতিযোগী চাইলে ৩ টি টপিকেই অংশগ্রহণ করতে পারবে। কবিতা/ছোটগল্প সর্বোচ্চ ১৫০ শব্দের মধ্যে। উন্মুক্ত লেখা (ফিচার) ১৫০-২০০(একক) বা ৬০০-৭০০(সম্মিলিত-৪ জন)। পোস্টের ক্যাপশনে নিচের নিয়ম অনুযায়ী দিতে হবেঃ #ফেলে_আসা_ঈদ_আনন্দ
#জগন্নাথ_বিশ্ববিদ্যালয়_ফিচার_রাইটার্স
#জগন্নাথ_বিশ্ববিদ্যালয়_প্রেস_ক্লাব     
প্রতিযোগীর লিখার সাথে নাম, ডিপার্টমেন্ট, ব্যাচ লিখে দিতে হবে। যদি কোনো অংশগ্রহণকারীর ফেসবুক আইডি না থাকে তবে সেক্ষেত্রে অংশগ্রহনকারী বাবা, মা অথবা ভাই, বোনের আইডি থেকে তার নাম এবং সে কোন ডিপার্টমেন্টে পড়ে ও ব্যাচ উল্লেখ করে দিতে হবে।

মূল্যায়ন পদ্ধতিঃ আপনার পুরো কাজের ৫০%  বিচারক প্যানেল এবং বাকি ৫০% আপনার জমা দেওয়া পোস্টের লাইক, কমেন্ট, শেয়ার বিবেচনার ভিত্তিতে দেওয়া হবে। বেশি নাম্বার পেতে তাই বন্ধুদের মেনশন/কমেন্ট/শেয়ার করতে পারবেন বেশি করে। প্রতিযোগিতা শেষ হওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যে বিজয়ী নাম প্রকাশ করে হবে "Jagannath University Feature Writer’s" গ্রুপে।
প্রতিযোগীর পোস্ট বাতিল হওয়ার কারনঃ পোষ্টে কোন ধরণের ব্যক্তি বা ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের নাম বা লোগো ব্যবহার করা যাবেনা। শুধুমাত্র Jagannath University Feature Writer's গ্রুপের লিংক ছাড়া অন্য কোন লিংক ব্যবহার করলে। দেরি না করে এখনই আপনার ফেলে আসা ঈদ আনন্দ অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন আর জিতে নিন ঈদ সালামী। ৫ আগস্ট সন্ধ্যা ৭ টা থেকে শুরু হয়েছে "ফেলে আসা ঈদ আনন্দ" নামের এই প্রতিযোগিতা! তাই এখনই আপনার ফেলে আসা ঈদ আনন্দ গল্প/কবিতাটি সাজিয়ে নিন। প্রতিযোগিতা চলবে ৫ আগস্ট থেকে শুরু করে থেকে ১০ আগস্ট এই ৫ দিন। আর এ প্রতিযোগিতা অংশগ্রহণ করতে পারবেন Jagannath University Feature Writer's ফেইসবুক-গ্রুপ এর মাধ্যমে। ফেলে আসা ঈদ আনন্দ প্রতিযোগীতা সম্পর্কে যেকোনো প্রশ্ন করা যাবে ফেসবুক গ্রুপে।
 এই প্রতিযোগিতার সার্বিক সহযোগিতার রয়েছে "জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাব"। গ্রুপ লিংকঃ https://www.facebook.com/groups/2662102700736788/