এভাবে আর যাতে কেউ প্রাণ না হারায়- সিনহার মা

এভাবে আর যাতে কেউ প্রাণ না হারায়- সিনহার মা



নিউজ ডেস্কঃ কক্সবাজারে তল্লাশি চৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা সিনহা রাশেদ খানের মা নাসিমা আক্তার বলেছেন, এভাবে আর যাতে কেউ প্রাণ না হারায় সেটাই তার চাওয়া।

এখনকার ছোট ছোট শিশুদের সামনে একটি সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ার জন্য এ ধরনের হত্যাকান্ড বন্ধ হওয়া দরকার বলে মন্তব্য করেছেন সন্তানহারা এই মা।

অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তাদের সংগঠন রাওয়া’র নেতারা সোমবার দুপুরে উত্তরায় সিনহাদের বাসায় যান তার মায়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে। তাদের সঙ্গে আলোচনার পর সাংবাদিকদের কাছে এই প্রতিক্রিয়া জানান নাসিমা আক্তার।

রিটায়ার্ড আর্মড ফোর্সেস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের (রাওয়া) চেয়ারম্যান খন্দকার নুরুল আফসার এই হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে কক্সবাজারের পুলিশ সুপারকে প্রত্যাহারের দাবি জানান।

তিনি বলেন, “ওই ঘটনায় যে সমস্ত পুলিশ জড়িত ছিল তাদের অস্ত্রগুলো যাতে জব্দ করা হয়। এটা লাগবে তদন্তের খাতিরে। যারা তদন্তের দায়িত্ব নিয়েছে তারা হয়ত এটা করবে। যারা তদন্তের দায়িত্ব নিয়েছে তারা অত্যন্ত দক্ষ এবং পক্ষপাতহীনভাবে তদন্ত করবে।”

তদন্তের অগ্রগতিতে সন্তোষ জানান অবসরপ্রাপ্ত এই সেনা কর্মকর্তা। সিনহার মাও ছেলের হত্যা মামলার অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

নাসিমা আক্তার বলেন, “সিনহা হত্যাকান্ডের ঘটনায় এ পর্যন্ত তদন্তে আমরা সন্তুষ্ট। আমার ছেলে পজিটিভ ছিল এবং সব সময় বলত ‘বি পজিটিভ’ এবং আমিও ‘বি পজিটিভ’র পক্ষে আছি।”

প্রধানমন্ত্রী, সেনাবাহিনী প্রধানসহ সব বাহিনীর প্রধানদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, “আমার হৃদয় ছিঁড়ে যাচ্ছে… দেশের সুন্দর একটি পরিবর্তন আমরা আনব, আপনারাই আনবেন। একটা সুন্দর পরিবর্তনের দরকার। সামনের যে ছোট ছোট বাচ্চাগুলো রয়েছে।

“প্রত্যেক মায়ের প্রতিনিধি হিসেবে বলব যে, এই জিনিসগুলো (বন্দুকযুদ্ধ) যাতে আর না হয়। প্রত্যেকে যাতে সচেতন থাকে।”

সিনহা কেমন ছিলেন, কেন চাকরি ছেড়েছিলেন, জীবন ও চারপাশ নিয়ে তার ভাবনা কেমন ছিল তার একটি বিশদ বিবরণ তুলে ধরেছেন মা।

তিনি বলেন, “আমার ছেলে সাধারণ জনগণ থেকে আরম্ভ করে সবাইকে আপন করে ভাবত, আপন করে দেখত প্রত্যেকটা মানুষকে। তার সঙ্গে গাড়িতে করে অনেক ঘুরেছি কিন্তু দেখতাম সে মেজর পরিচয় দিত না। তার যে ব্যবহার, ব্যবহার দিয়ে সে তার কাজগুলো করতে।

“আমি তাকে এই শিক্ষাই দিয়েছি, আমার এটা ভালো লাগত।”

সেনাবাহিনীর চাকরি ছেড়ে দেওয়ার পর ছেলের কাছে কারণ জানতে চেয়েছিলেন জানিয়ে নাসিমা আক্তার বলেন, “তার কাছে জানতে চাইলাম যে বাবা তুমি যে চলে আসলে তাহলে প্রতিটা কোর্স এত কষ্ট করে কেন করলে? এখন কত প্রমোশন হত কত কিছু হত।

“বলত মাম্মি ক্ষমতা কী? সবার আজ আছে তো কাল নেই, মানুষের হৃদয়ের মধ্যে থাকব, মানুষের জন্য কাজ করব।”

ছেলে কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী ছিলেন মন্তব্য করে তিনি বলেন, “আমাকে মুখে বলত না, কিন্তু বুঝতাম যে, কর্মে বিশ্বাসী ছিল সিনহা। এই যে বিশ্ব ভ্রমণ করবে কিন্তু পরিকল্পনা এবং প্রতিটা বিষয় পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে করত। জানাতে চাইত না সারপ্রাইজ দিবে দেশকে।

“পরবর্তী জেনারেশনের কথা অনেক ভাবত। বলত, এই পৃথিবীতে আমরা ভালো থট রেখে যাই। যারা নেগেটিভ ভাবত তাদের বিষয়ে বলত যে, কেন হবে না? হবে না কেন?”

সিনহার প্রতিটি কর্মকান্ডে তার পূর্ণ সমর্থন ছিল জানিয়ে মা বলেন, “ও যেটা করত ভেতরে ভেতরে গর্ব বোধ করতাম। আসলে ওর চরিত্রের সঙ্গে আমার চরিত্রের মিল আছে- কোনো চাহিদা ছিল না, কোনো কিছু ছিল না। সিনহা শুধু কাজ করতে চাইত, আর সে কাজের জন্য আমি কখনও বাধা দেইনি, কেন দিব?”

সিনহার বিয়ে না করার বিষয়ে তিনি বলেন, “সবাই বিয়ে করে তুমি বিয়ে করো না কেন জানতে চাইলে সিনহা বলত, আরে ওসব ঝামেলায় জড়ায়ে লাভ নেই। আমি ঘুরতে যাব, এখানে যাব সেখানে যাব, পিছুটান থাকলে সব কাজ সঠিকভাবে করা যায়না।

“ডকুমেন্টারি করতে গেল এটার বিষয়ে সিনহা ভাসা ভাসা বলত, সারপ্রাইজ দিতে চাইত।”

নাসিমা আক্তার বলেন, সিনহা চাকরি ছাড়ার পরে তিনি নিজে ও আত্মীয়-স্বজনরা জানতে চাইতেন, কী কাজ করে যে কোনো টাকা-পয়সা আসে না?

“সিনহা বলত, আমি তো আমার মনের খোরাকের জন্য কাজ করি। আমার মনের খোরাক এটা দিয়ে কেউ উপকৃত হবে। আমার দুইটা উদ্দেশ্য- আমার যেটা ভালো লাগে সেটা করব এবং এটা দিয়ে যেন কেউ উপকৃত হয়। এখানে টাকা-পয়সার কথা আসে না, আসবে না।”

নাসিমা আক্তার বলেন, “কী কাজ করো জানতে চাইলে আমাকে বলে, ডকুমেন্টারি তৈরি করছি। বলার মতো যখন হবে তখন বলব।

“ছেলের প্রতি শতভাগ আস্থা নিয়ে আমি বসে আছি, আমার ছেলে কাজ করতেছে।”

সিনহা সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিয়ে বাবা-মায়ের গতানুগতিক ভাবনার বিরোধী ছিলেন জানিয়ে তার মা বলেন, “সিনহা বলত আমাদের দেশের পিতা মাতা কেমন জানি শুধু সন্তানদের ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার বানাতে চান। আরে তোমাদের (পিতা-মাতা) জন্য কেন আমরা বলির পাঠা হব?

“তোমরা সন্তানকে ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার বানিয়ে গল্প করবে, আর আমরা আমাদের তো মনের ইচ্ছা অপূর্ণ থাকবে; কেন? তাই বলত। এগুলো বলে আমার সঙ্গে মজা করত আর আমিও তাকে বুঝাতাম আমাদের দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা এ রকম।”

ছেলের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, “বাসায় আসত টুকটাক কাজ করত- আমার মশারি টাঙিয়ে দিত, সারা রাত কাজ করত, বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরত-ফিরত। বাসায় এসে নিজে রান্না ঘরে গিয়ে ফ্রিজ থেকে খাবার নামিয়ে গরম করে খেয়ে রান্না ঘর অনেক পরিষ্কার করে রাখত। এখানে যে সে খেয়েছে দেখলে বোঝা যেত না এত পরিষ্কার করে রাখত। কত কথা কত কী… এভাবেই দেখতাম আমার ছেলেকে।”

সিনহার একটি বিষয়ে ভয় কাজ করত জানিয়ে তার মা বলেন, “সে গাড়ি অনেক জোরে চালাত। এত জোরে গাড়ি চালায় কখন যে কী হয়ে যায়, এটাই ভাবতাম।”

গত ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার মেরিন ড্রাইভ সড়কে বাহারছড়া চেকপোস্টের কাছে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সিনহা। এই হত্যা মামলায় টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ সাত পুলিশ সদস্য গ্রেপ্তার হয়েছেন। তিন কর্মকর্তাকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে র‌্যাব।

টেকনাফ থানা থেকে ওই রাতে যোগাযোগ করা হলেও ছেলের মৃত্যুর খবর তাকে দেওয়া হয়নি জানিয়ে সিনহার মা বলেন, “সে রাতে এক ভদ্রলোক ফোন দিয়ে জানতে চাইলেন, সিনহা আপনার কী হয়? আমি বললাম, আমার ছেলে হয়। ওই লোক জানতে চাইলেন, কী করে জানেন? তখন আমি বললাম, টুকটাক কাজ করে। ডকুমেন্টারি বানানোকে আমি টুকটাকই বলি।

“এত রাত্রে এই ভদ্রলোক আমাকে ফোন করে এত কিছু জানতে চাচ্ছে কেন তা ভেবে আমি একটু রূঢ়ভাবে বললাম, আপনি কে? ওই ভদ্রলোক বললেন আপনি আমার সঙ্গে এভাবে কথা বলতেছেন কেন, আমি টেকনাফ থানার ওসি।

“তখন ভাবলাম ওসি যেহেতু, আমার ছেলে যেহেতু গাড়ি চালায় নিশ্চয়ই কিছু একটা হয়েছে। আমি ওসির কাছে জানতে চাইলাম যে, আমার ছেলের ফোনটা বাজছে কিন্তু ফোন ধরছে না ওকে একটু ফোনটা দিন।

“ওসি বলল, দেওয়া যাবে ও একটু দূরে আছে, বলে রেখে দিল। কিন্তু পরে বার বার ফোন দিচ্ছি ফোন ধরছে না।

“রাত ১টা বেজে গেছে, কিন্তু আমি কার কাছ থেকে খবর নিব অস্থির হয়ে যাচ্ছি। যেসব ছেলেরা তার সঙ্গে কাজ করে তাদের ফোন নম্বর আমার কাছে ছিল না।”

সিনহা এর আগেও একবার হাওরে গেলে তাকে ফোনে না পেয়ে অস্থির হয়ে উঠেছিলেন জানিয়ে নাসিমা আক্তার বলেন, “ফিরে আসার পরে বললাম, এভাবে ফোনে না পেলে তো আমি অস্থির হয়ে যাই, আমি চিন্তা করি তখন সে তার দুই কোর্সমেটের নম্বর আমাকে দেয়। সেই রাতে আমার মোবাইলে সেভ করে দেওয়া ওই দুই কোর্সমেটের নম্বর খুঁজে পাই না, মাথাও ঠিক মতো কাজ করছিল না। পরে মেজর মহসিনের নম্বর খুঁজে পাই এবং তাকে ফোন করি।

“মহসিনকে বললাম টেকনাফ থানার ওসি ফোন করেছে তখন সে আমাকে জানায়, ওখানে আমাদের কোর্সমেট আছে আপনি টেনশন করবেন না। আপনি ঘুমান, ওরা দেখতেছে।

“সকালে মহসিনকে ফোন দিতে একটু সময় নিচ্ছি কারণ ঈদের দিন ওদের অনেক বিধি থাকে, আমি তো আমার ছেলেকে দেখেছি তাই একটু সময় নিচ্ছি ওকে ফোন দিতে। এর মধ্যে সকাল ১১টার দিকে উত্তরা পশ্চিম থানার পুলিশ এসেছে। জানতে চাইল এটা মেজর সিনহার বাসা কি না। আমি ভাবলাম অনেকে ভুয়া মেজর পরিচয় দিয়ে থাকে; হয়ত আমার ছেলে সত্যিকারের সাবেক মেজর কি না এটা যাচাই করতে এসেছেন।

“আমি ভেবেছি ওখানে (কক্সবাজার) যদি কোনো জটিলতা তৈরি হয়ে থাকে তাহলে এটা থাকবে না। আমি পুলিশকে সহযোগিতা করেছি এবং ওনারাও আমার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করে চলে যান।

“তবে পুলিশ জানতে চেয়েছিল, সিনহা কেন চাকরি ছেড়েছে এবং কোনো রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিল কি না। আমি যা যা  সত্য তা বলে দিয়েছি এবং সে কখনও কোনো দিন দেখিনি কোনো রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকতে।”

সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার বলেন, “আমাদের একটাই আবেদন, দ্রুত তদন্ত করে এবং সঠিকভাবে তদন্ত করে বিচারটা যেন হয়।

“এটা যেন একটা দৃষ্টান্ত স্থাপন করে। অন্যদের মোটিভেট করে যে, আইনের প্রতি আমরা শ্রদ্ধাশীল এবং আমাদের দেশে আইন আছে, আমাদের দেশে বিচার হয়।”

রাওয়া-এর চেয়ারম্যান খন্দকার নুরুল আফসার বলেন, “মর্নিং শোজ দা ডে। এ পর্যন্ত সত্যিকার অর্থে আমরা যা দেখেছি, সরকারের যে মনোভাব, প্রশাসনের যে মনোভাব। আপনারা শুনতে পেলেন সিনহার মাও খুশি এবং অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তাদের অ্যাসোসিয়েশনের আমি চেয়ারম্যান, তাদের পক্ষ হয়ে বলছি, আমরা এ পর্যন্ত খুশি।

“আমাদের আবেদন বিচারটা যাতে দীর্ঘায়িত না হয়। কারণ এটা ইতোমধ্যে প্রমাণিত, পারিপার্শ্বিক সাক্ষ্যে প্রমাণিত ঠান্ডা মাথায় হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যা যাতে আর না হয়।”

অবসরপ্রাপ্ত এই সেনা কর্মকর্তা বলেন, “আজ সিনহার বিষয়ে আমরা সোচ্চার হয়েছি। কিন্তু ওই যে ১৪০টা মার্ডার হয়েছে, একটা একটা করে প্রত্যেকটার বিচার হোক।”

এ রকম হত্যাকাণ্ড যেন আর

চৌগাছায় জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে জরুরি বিজ্ঞপ্তি

চৌগাছায় জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে   জরুরি বিজ্ঞপ্তি

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ 

বাঙ্গালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালনে আগামী রোজ বুধবার (১২-০৮-২০২০) ইং সকাল ১০ ঘটিকায় চৌগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে  প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হবে। 


উক্ত বর্ধিতসভায় চৌগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সকল ইউনিটের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক /আহবায়ক /যুগ্নআহবায়ক কে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হলো। 


স্থানঃ উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যলয়।

সময়ঃ সকাল ১০ ঘটিকায়। 


আদেশক্রমেঃ


ইব্রাহীম হুসাইন

সভাপতি

চৌগাছা উপজেলা ছাত্রলীগ!


শফিকুজ্জামান রাজু

সাধারণ সম্পাদক 

চৌগাছা উপজেলা ছাত্রলীগ!

ময়মনসিংহের তারাকান্দায় সৎ মায়ের বিরুদ্ধে শিশু হত্যার অভিযোগ

ময়মনসিংহের তারাকান্দায় সৎ মায়ের বিরুদ্ধে শিশু হত্যার অভিযোগ



স্টাফ রিপোর্টার : আর.জে মিজানুর রহমান ইমন : 


ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার ৬নং ডাকুয়া ইউনিয়নের ভালকি গ্রামের মোঃ আবু চাঁনের স্ত্রী শামসুন্নাহারের বিরুদ্ধে তার সৎ মেয়ে লাবনী আক্তার (৮) নামে এক শিশুকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে । এ ঘটনায় পুলিশ শামসুন্নাহার কে গ্রেফতার করে ৯ই আগষ্ট রবিবার আদালতে পাঠিয়েছে ।


শিশুটির মা শামসুন্নাহার তার সৎ মা ছিলো তার আপন মা নিরুদ্দেশ হওয়ার ৫বছর পর, তার বাবা মোঃ আবু চাঁন তার সৎ মাকে বিয়ে করে । সূত্রে জানা যায়, ০৮ই আগষ্ট শনিবার সন্ধা ০৭:টার দিকে মোঃ আবু চাঁনের প্রথম স্ত্রীর মেয়ে লাবনী আক্তারের লাশ ভাসতে দেখে এলাকাবাসী । তবে এলাকাবাসীর ধারণা শিশুটির সৎ মা তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ ফেলে রেখেছে । 


খবর পেয়ে ঘটনাস্থলেই পুলিশ লাশ উদ্ধার করে, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে পাঠিয়েছে । এ ঘটনায় মোঃ আবু চাঁন তার দ্বিতীয় স্ত্রী শামসুন্নাহারের বিরুদ্ধে তারাকান্দা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন । সৎ মা শামসুন্নাহার কে বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হয়েছে, তারাকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল খায়ের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ।

নাগরপুরে পল্লী চিকিৎসক মাও.সিরাজুল ইসলামের নিজস্ব অর্থায়নে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ

 নাগরপুরে পল্লী চিকিৎসক মাও.সিরাজুল ইসলামের নিজস্ব অর্থায়নে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ

 


ডা.এম.এ.মান্নান


টাংগাইল জেলা প্রতিনিধিঃ


নাগরপুর উপজেলা মামুদনগর পুরাতন বাজারের মদিনা ফার্মেসীর মালিক ও পল্লী চিকিৎসক মাওঃ মোঃ সিরাজুল ইসলাম গরিবের বন্ধু নামে সুপরিচিত।


তার নিজস্ব অর্থায়নে মামুদনগর বাজারে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের জন্য মাস্ক বিতরণ করেন।গরীর রোগীদের মাঝে ফ্রি ঔষধও  বিতরণ করেন। 


আজ সোমবার, ১০ আগষ্ট ২০২০ খ্রিঃ বিকাল ৪.০০ টায় করোনা প্রতিরোধের জন্য  মাস্ক বিতরণ করেন। 


পল্লী চিকিৎসক মাওঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে  আমার নিজস্ব উদ্যোগে কাজ করে যাচ্ছি।আমি বিভিন্ন সময় গরীব ছাত্র ছাত্রীদের বই খাতা কলম বিতরণ করেছি এবং ফ্রি চিকিৎসা ও ঔষধ বিনামূল্যে বিতরণ করেছি। 


করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণের  কর্মসূচি চলমান আছে ও থাকবে, ইনশাআল্লাহ।


সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন আমি যেন দেশের ও মানুষের সেবা করতে পারি এবং সেবা প্রদান কার্যক্রমটি চলমান রাখতে পারি ।

বশেমুরবিপ্রবি লাইব্রেরিতে চুরির ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চারজনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে

 বশেমুরবিপ্রবি লাইব্রেরিতে চুরির ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চারজনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে



সুমন,বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি ঃগোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরিতে  কম্পিউটার চুরির ঘটনার তদন্ত কমিটির পর এবার জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য চারজনকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।


খবরটি নিশ্চিত করেছেন গোপালগঞ্জের থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।তিনি জানান,প্রাথমিকভাবে তাদের কাছে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।


ওই চার ব্যক্তি হলো সিকিউরিটি অফিসার তরিকুল, মোঃ আতিকুর রহমান, ননীগোপাল রায় এবং গার্ড নাসিম।

করোনা আক্রান্ত হয়ে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওয়ার্ড আ'লীগ সভাপতি

 করোনা আক্রান্ত হয়ে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওয়ার্ড আ'লীগ সভাপতি




আহসান  উল্লাহ  বাবলু উপজেলা প্রতিনিধিঃ আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের ০৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি, নৈকাটি দাখিল মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি, সাবেক ইউপি সদস্য, গ্রাম্য ডাক্তার নুরুল ইসলাম করোণায় আক্রান্ত হয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।


১লা আগস্ট থেকে জ্বর, সর্দি, কাশিসহ করোনা ভাইরাসের বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে নৈকাটিস্থ তার নিজ বাসভবনে চিকিৎসাধীন থাকার পর অবশেষে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ৮ আগষ্ট একটি বেসরকারি হাসপাতালে কিছু পরিক্ষা নিরিক্ষা শেষে রিপোর্ট করোনা পজেটিভ দেখা গেলে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে।


তার রোগমুক্তির জন্য পরিবার, আত্মীয়-স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষী ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সকলের কাছে দোয়ার অনুরোধ জানান হয়েছে।

ঢাকা ১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জনাব,মোজাম্মেল হক-কে এমপি হিসাবে দেখতে চাই

ঢাকা ১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে  সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জনাব,মোজাম্মেল হক-কে এমপি হিসাবে দেখতে চাই



উন্নয়নের অভিযাত্রার ও অধম্য সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নের লক্ষ্য নিয়ে ঢাকা ১৮ আসনের সংসদ সদস্য মরহুম অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের অসমাপ্ত উন্নয়নের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্য নিয়ে 

ঢাকা ১৮ আসনের উপনির্বাচনে জাতীয় সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী হিসেবে  সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পিতা মুজিবের জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিব বাহিনীর সংগঠক মহান মুক্তিযুদ্ধের সাহসী ভূমিকায় নেতৃত্বদানকারী শহীদ মরহুম শেখ কামালের সহযোদ্ধা সঙ্গী, বন্ধু ও ক্লাস ফ্রেন্ড সাবেক ছাত্রনেতা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার স্নেহভাজন ও আস্থাভাজন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক, জনাব, মোজাম্মেল হক  

উপদেষ্টা  বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ নরসিংদী জেলা শাখা ও সদস্য নির্বাচন পরিচালনা উপ-কমিটির বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রীর কার্যালয় ৩/এ ধানমন্ডি ঢাকা। 

আমরা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন, কুয়েত শাখা থেকে 

জনাব, মোজাম্মেল হক সাহেব-কে ঢাকা ১৮ আসনের এমপি হিসাবে দেখতে চাই ।


দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুর

সাধারণ সম্পাদক

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন, কুয়েত শাখা

মাধবপুরে বিজিবির অভিযানে ভারতীয় চা পাতা সহ আটক ২

 মাধবপুরে বিজিবির অভিযানে ভারতীয় চা পাতা সহ আটক ২




লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃহবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী তেলিয়াপাড়া চা বাগান থেকে ভারতীয় চা পাতা সহ সতেজ তাঁতি (৫০) ও মো. জিল্লুর রহমান (৩৩) নামে দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে বিজিবি।

আটককৃত সতেজ তাঁতি হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়নের


তেলিয়াপাড়া চা বাগানের মৃত গোলক তাঁতির পুত্র এবং জিল্লুর রহমান একই এলাকার সুরমা গ্রামের মৃত শাহেদ মিয়ার পুত্র সোমবার (১০ আগস্ট) সকালে তেলিয়াপাড়া বিওপি এর হাবিলদার মো:ইছাব্বার আলীর নেতৃত্বে বিজিবির একটি টহল দল অভিযান চালিয়ে।


তেলিয়াপাড়া চা বাগানের বীচ লাইন এলাকা থেকে ৩৭৮ কেজি ভারতীয় চা পাতা সহ উল্লেখিত দুই ব্যাক্তিকে আটক করে। হবিগঞ্জ ব্যাটালিয়ন (৫৫ বিজিবি) এর অধিনায়ক এস এন এম সামীউন্নবী চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান আটককৃত ব্যক্তিদের মাধবপুর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

বাবুখালী অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের উপযোগিতা বিষয়ক কর্মশালা,

বাবুখালী অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের উপযোগিতা বিষয়ক কর্মশালা,




মোঃকুতুবুল আলম,মহম্মদপুর(মাগুরা)

বাবুখালীতে পুলিশ ক্যাম্পের প্রয়োজন আছে কি? তার উত্তর আশা করি প্রিয় পাঠক আপনারা দিবেন!


আজ সোমবার সকালে ১১ টার সময় বাবুখালী ইউপি পরিষদের হলে রুমে বাবুখালীতে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের উপযোগিতা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

এ সময় মহম্মদপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহেল কাফী কে সভাপতি ও ১ নং বাবুখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মীর মো: সাজ্জাদ আলীকে সদস্য সচিব করে ১০ সদস্য বিশিষ্ঠ কমিটি গঠন করা হয়।


ক্যাম্পের স্থায়ী জায়গা না পাওয়া গেলে দ্রুত বাবুখালী অস্থায়ী ক্যাম্প সরিয়ে নেওয়া হবে বলে জানা গেছে। মুলত; আজকের পুলিশ ক্যাম্পের উপযোগিতা বিষয়ক কর্মশালা বিষয় ছিলো স্থায়ী ক্যাম্প গড়ে তুলতে কেউ জমি দেবেন কিনা? মোট ৩০-৩৩ শতাংশ জমির প্রয়োজন।


এ সময় ক্যাম্পের উপযোগিতা অনুষ্ঠানে মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ তারক বিশ্বাসের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলের, মাগুরা পুলিশ সুপার খান মোহম্মদ রেজোয়ান, বিশেষ অতিথি ছিলেন, মহম্মদপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহেল কাফী।


এছাড়া অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, (শালিখা সার্কেল) আবির সিদ্দিকি শ্রভ্র, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শেখ মো. রাসেল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ বরকত আলী, জেলা পরিষদ আলী আহম্মেদ মৃধা মিঞ্জু, দীঘা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম হিরু মিয়া, বিনোদপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শিকদার মিজানুর রহমান, সাবেক পাঁচ বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান সৈয়দ হাফিজুর রহমান বাকি মিয়া, বাবুখালী পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ সৈয়দ ফরহাদ হোসেনসহ স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ ও মাধ্যমিক, মাদ্রাসার শিক্ষক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে ছাত্রলীগ কর্মীকে হাতুড়ি পেটা

ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে ছাত্রলীগ কর্মীকে হাতুড়ি পেটা



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃঝি

নাইদহের কালীগঞ্জে ইরফান রাজা (রুকু) নামে এক ছাত্রলীগ কর্মীকে প্রকাশ্যে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার শহরের মেইন বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন রহমানিয়া সুপার মার্কেটের সামনে। রুকু শহরের মধুগঞ্জ এলাকার মোবারক হোসেনের ছেলে।


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সোমবার সকালে মোটরসাইকেলে ধাক্কা লাগাকে কেন্দ্র করে রুকুর ভগ্নিপতি আব্দুর রহিমকে খয়েরতলা গ্রামের রুবেলের ছোট ভাই এমরান কিলঘুষি মারে। এরপর প্রতিবাদ হিসেবে দুপুরে রুকুর লোকজন রুবেলের দোকানের সামনে মহড়া দিতে যায়। এ সময় খবর পেয়ে রুবেল ৭/৮ টি মটর সাইকেলে লোকজন নিয়ে এসে রহমানিয়া সুপার মার্কেটের সামনে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে রুকুকে জখম করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করে।


কালীগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত মতলেবুর রহমান জানান, রুকু নামের একজনকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছেন। আমি নিজেও হাসপাতাল পরিদর্শন করেছি। তবে এখনও কেউ অভিযোগ দিতে থানায় আসেননি।

আশাশুনিত পুলিশের অভিযানে চোরাই মালামাল উদ্ধারসহ তিন চোর আটক

আশাশুনিত পুলিশের অভিযানে চোরাই মালামাল উদ্ধারসহ তিন চোর আটক



আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা   প্রতিনিধি: আশাশুনিতে পুলিশের অভিযানে চোরাই মালামালসহ তিন চোরকে আটক করা হয়েছে। সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, পিপিএম(বার) এর দিক নির্দেশনায়, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, দেবহাটা সার্কেল মোঃ শেখ ইয়াছিন আলীর তত্ত্বাবধানে, আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবিরের নেতৃত্বে আশাশুনি থানা এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে এসআই মোঃ হাসানুজ্জামন, এ এসআই মিলনসহ সঙ্গীয় ফোর্স এর সহায়তায় বুধহাটা বাজারের আনন্দ ভ্র‍্যারাইটিস স্টোর (মুদি দোকান) থেকে ৪২ পিস লাইফবয় সাবান, ১৬ পিস স্যান্ডেলিনা সাবান, ১৮ পিস পেপসোডেন্ট টুথ পাউডার, ১০ পিস প্যারাসুট নারিকেল তৈলের বোতল, নগত ৩৯০ টাকাসহ আটক করেন। বুধহাটা প্রাইমারী স্কুলের পিছনে খলিলের বাসার ভাড়াটিয়া বুধহাটা গ্রামের ইন্তাজ আলী সরদারের পুত্র মোঃ রেজাউল ইসলাম ওরফে (গজো) (৩৫), শ্যামনগর উপজেলার মৃত জাফর আলী গাজীর পুত্র মোঃ সাহাজান গাজী (৪৮), মৃত এলবার সরদারের পুত্র মোঃ শফিকুল ইসলাম (৫০)কে চোরাই মালামালসহ সোমবার ভোরে আটক করা হয়। এসংক্রান্তে থানায় ৮(৮)২০২০ মামলাটি রুজু করে আসামীদেরকে সোমবার দুপুরে বিচারার্থে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নাসিরনগরে বিদ্যুৎ পিষ্টে দাদা নাতীর করুন মৃত্যু

নাসিরনগরে বিদ্যুৎ পিষ্টে দাদা নাতীর করুন মৃত্যু



এস.এম অলিউল্লাহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি।


 ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগরে বিদ্যুৎ পিষ্ট হয়ে দাদা নাতীর করুন মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল ও আজ সকাল ১০ আগষ্ট ২০২০ রোজ সোমবার সকাল ৭ ঘটিকার সময় উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নের খাগালিয়া গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী মোঃ ইকবাল মিয়ার ছেলে বায়েজীদ মিয়া (৫) কে গতকাল বিকেল থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। আজ সকাল ৭ ঘটিকার সময় বায়েজীদের দাদা সাবেক চেয়ারম্যান কফিল উদ্দিন আহমেদ বাজারে বসে নাস্তা খাচ্ছিল। এ সময় ২/১ জন বাচ্চা দৌড়ে এসে বায়েজীদের দাদাকে জানায়, তাদের দোকান ঘরে বায়েজীদের লাশ পড়ে রয়েছে। খবর পেয়ে দাদা কফিল উদ্দিন (৬৫) দৌড়ে গিয়ে নাতীকে উদ্ধার করতে চাইলে তিনিও বিদ্যুৎ পিষ্ট হয়ে মৃত্যু বরণ করেন। দাদা নাতীর করুন মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে পরে।

ইসরাফিল আলমের যে অবদান তা স্মরণ করে তাকে আজীবন সম্মান করা যায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক

ইসরাফিল আলমের যে অবদান তা স্মরণ করে তাকে আজীবন সম্মান করা যায়  বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক




মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

রাজশাহী ব্যুরো


নওগাঁ-০৬(আত্রাই-রাণীনগর) এর স্থানীয় সংসদ সদস্য,শ্রম ও কর্মসংস্থান এবং পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য  ও নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইসরাফিল আলমের  মৃত্যুতে ও ১৫ আগষ্ট উপলক্ষে  বিশেষ  সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

আত্রাই উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সোমবার আওয়ামী দলীয় কার্যালয়ে  সকাল ১০টায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।  


সভায় সভাপতিত্ব করেন,আত্রাই  উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শ্রী নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলাল । 

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন 

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাকিল আহমেদ বাদল।



এসময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আত্রাই উপজেলা  আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি  ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এবাদুর রহমান প্রামাণিক।


প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক প্রয়াত  ইসরাফিল আলম সম্পর্কে বলেন, আজীবন দেশ ও মানুষের সেবায় নিজেকে  উৎসর্গ করে গেছেন। তাঁর মৃত্যু দেশ ও জাতির জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।ইসরাফিল আলমের যে অবদান - তা স্মরণ করে তাকে আজীবন সম্মান করা যায়।তিনি আরো বলেন আত্রাই রানীনগর আসনে আসন্ন উপ নির্বাচনে যে কেউ নৌকার প্রার্থীতার জন্য আবেদন করতে পারেন।কিন্তু প্রচারনায় সময় কোন নেতা কর্মী কারো পক্ষে কাজ করতে পারবেনা। এতে কোন বিঙ্খৃংলা হলে তা কঠোর হাতে দমন করা হবে এবং সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 


সভাপতির বক্তব্যে শ্রী নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলাল বলেন, বিএনপি-জামায়াতের স্বৈরাচারী গণবিরোধী শাসনের বিরুদ্ধে আন্দোলনে অগ্রণী সাহসী ভূমিকার জন্য প্রয়াত ইসরাফিল  আলম চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন।আত্রাই রানীনগের শান্তি ও উন্নয়নের অগ্রদূত ছিলেন প্রয়াত ইসরাফিল আলম। 


সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগ,উপজেলার ৮ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক,ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বৃন্দ সহ  যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ,জাতীয় শ্রমিক লীগ,যুব মহিলা লীগ,ছাত্রলীগের সভাপতি - সাধারন সম্পাদক নেতৃবৃন্দ অংশ নেন।  


সভা পরিচালনা করেন আত্রাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল।তিনি বলেন আগামী ১৫ আগষ্টে প্রতিটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ে ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস ও প্রয়াত ইসরাফিল আলমের মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা নির্দেশ প্রদান করেন।

আত্রাইয়ে শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে চারা বিতরণ

 আত্রাইয়ে শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে চারা বিতরণ




 রাজশাহী ব্যুরো

 নওগাঁর আত্রাইয়ে উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অফিসের আয়োজনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জ্যেষ্ঠ পুত্র শেখ কামালের ৭১ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ফলদ ও বনজ বৃক্ষের চারা বিতরণ করা হয়েছে।


সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে দুই’শ জনের মাঝে চারা বিতরণের উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ছানাউল ইসলাম। 


এসময় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবাদুর রহমান প্রামানিক, এসিল্যান্ড আরিফ মুর্শেদ মিশু, ভাইস চেয়ারম্যান শেখ হাফিজুল ও মমতাজ বেগম, যুব উন্নয়ন অফিসার ফজলুল হক, মহিলা বিষয়ক অফিসার মোয়াজ্জেম হোসেন, আত্রাই প্রেসক্লাব সভাপতি রুহুল আমীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নওগাঁর আত্রাইয়ে আলোর পথে ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প

নওগাঁর আত্রাইয়ে আলোর পথে ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প




 মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

 রাজশাহী ব্যুরো


নওগাঁর আত্রাইয়ে গোয়ালবাড়ি আলোর পথে ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ সোমবার  সকাল ১০টার দিকে গোয়ালবাড়ি গ্রামে এ  ক্যাম্পের উদ্বোধন করা হয়। ক্যাম্প চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

দিনব্যাপী এ ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন এলাকার বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও ঐ গ্রামের মুরব্বি আবুল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজ সেবক আবু তাহের। গোপালবাড়ি আলোর পথে ফাউন্ডেশনের উদ্যোক্তা এবং আত্রাই উপজেলা হিউম্যান রাইটস রিভিউ সোসাইটির ভাইস প্রেসিডেন্ট মোঃ আব্দুস সালাম মীর এর সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন ক্যাশিয়ার কামরুজ্জামান, মোঃ হামিদুর ইসলাম, প্রধান চিকিৎসক মোঃ হেলাল উদ্দিন সহকারি ফজলে রাব্বি এবং আশরাফুল ইসলাম এবং ফাউন্ডেশনের সদস্য বৃন্দ ও গ্রামের মুরুব্বিগণ।

ক্যাম্পে এসে চিকিৎসা পান প্রায় ২৫০জন রোগী। এছাড়াও বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির পক্ষ থেকে রোগীদের ফ্রি ওষুধ বিতরণ করা হয়।

ফাউন্ডেশনের উদ্যোক্তা আব্দুস সালাম মীর বলেন, গ্রামের অসহায় গরীব মানুষদের কথা চিন্তা করে গত সেপ্টেম্বর মাসে আমরা একটি ফাউন্ডেশন গঠন করি গোয়ালবাড়ি আলোর পথে ফাউন্ডেশন, আলোর পথে আসবো আদর্শগ্রাম গড়বো এই শ্লোগানকে বুকে ধারণ করে ৫১ জন সদস্য নিয়ে আমাদের পথ চলা। বিগত দিনে আমরা গ্রামের অসহায় মানুষদের নিয়ে কাজ করেছি, শিক্ষা খাতে, চিকিৎসা খাতে, বিবাহ খাতে, এবং খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছি যা ভবিষ্যতে অব্যাহত থাকবে। তিনি আরো বলেন আমরা মূলত কাজ করছি অসহায় মানুষদের জন্য আমরা কাজ করতে চাই। আমাদের গ্রামের সবাই স্বনির্ভর হোক, তাই দীর্ঘমেয়াদি বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি, তারই ধারাবাহিকতায় পরীক্ষামূলক এককালীন তিনটি ছাগল বিতরণ করেছি, এবং আগামীতে বিশটি পরিবারের মাঝে ছাগল বিতরণ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

ঝিকরগাছায় জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

ঝিকরগাছায় জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

 


মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত, ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ 


যশোরের ঝিকরগাছায় উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে  প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।


সোমবার ১০ আগষ্ট সকা‌লে ঝিকরগাছা উপ‌জেলা আওয়ামী লী‌গের উ‌দ্যো‌গে আওয়ামীলীগ এর অস্থায়ী কার্যাল‌য়ে  জা‌তির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মু‌জিবর রহমানের ৪৫ তম শাহাদাৎবা‌র্ষিকী ও ১৫ আগষ্ট "জাতীয় শোক দিবস ২০২০" পালন উপল‌ক্ষে প্রস্তু‌তিমূলক সভা অনু‌ষ্ঠিত হয়। 

ঝিকরগাছা উপ‌জেলা আওয়ামী লীগের সভাপ‌তি জাহাঙ্গীর আলম মুকুল ব্য‌ক্তিগত কার‌নে উপ‌স্থিত না হওয়ায় উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপ‌তিত্ব ক‌রেন উপ‌জেলা আওয়ামীলী‌গের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও উপ‌জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ম‌নিরুল ইসলাম। 


উক্ত প্রস্তুতিমূলক সভায় প্রধান অ‌তি‌থি হিসা‌বে উপ‌স্থিত ছি‌লেন , য‌শোর-২ আস‌নের মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য বীরমু‌ক্তি‌যোদ্ধা মেজর জেনা‌রেল (অবঃ) ডা. মোঃ না‌সির উ‌দ্দিন। উপ‌স্থিত ছি‌লেন উপ‌জেলা আওয়ামী লী‌গের সা‌বেক ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক জহুরুল হক, উপ‌জেলা ভাইস চেয়ারম্যান সে‌লিম রেজা, উপজেলা ম‌হিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুবনা তাক্ষী, নাভারন ইউ‌নিয়‌ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপ‌তি শাহাজান কবীর, মাগুরা ইউ‌নিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক , বাঁকড়া ইউ‌নিয়‌নের চেয়ারম্যান নেছার আলী, য‌শোর জেলা যুবলীগ নেতা আজাহার আলী, উপ‌জেলা যুবলীগ নেতা শামীম রেজা, জা‌ফিরুল হক, জুল‌ফিকার আলী ভু‌ট্টো, উপ‌জেলা ছাত্রলীগ সভাপ‌তি এহসানুল হা‌বিব শিপলু, সাধারন সম্পাদক কামাল হো‌সেন, গঙ্গানন্দপুর ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপ‌তি আতাউর রহমান ঝন্টু, শিমু‌লিয়া ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপ‌তি ম‌তিয়ার রহমান সরদার, গদখালী ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা শ‌হিদুল ইসলাম খোকন, ইউ‌নিয়ন ছাত্রলীগ সভাপ‌তি ও ইউ‌পি  মেম্বর  র‌ফিকুল ইসলাম, ঝিকরগাছা ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক শ‌ফিকুর রহমান, নাভারন ইউ‌নিয়ন  আওয়ামী লী‌গের সাধারন সম্পাদক র‌ফিকুল ইসলাম বু‌লি, নির্বাস‌খোল ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুস সাত্তার , ইউ‌পি  মেম্বর  আয়নাল হো‌সেন, হা‌জিরবাগ ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ নেত‌া নুরুল আ‌মিন মধু, শংকরপুর ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা ক‌বিরুজ্জামান মিঠু, নাজমুল হো‌সেন, পৌর কাউ‌ন্সিলর ক‌ফিল উ‌দ্দিন, আব্দুর রাজ্জাক নিটল, নিমাই চন্দ্র,সাইফুল আলম সুজন, উপ‌জেলা পূঁজা উদযাপন প‌রিষ‌দের সভাপ‌তি দুলাল চন্দ্র,  য‌শোর জেলা ট্রাক ও ট্যাংকলরী শ্র‌মিক ইউ‌নিয়‌নের সভাপ‌তি গোলাম মোস্তফা, সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর হো‌সেন, বাঁকড়া ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুস সামাদ, যুবলীগ সভাপ‌তি আবুল কালাম আজাদ, প্রমূখ।

চুরির তদন্তে সাত সদস্যের কমিটি গঠন করলো বশেমুরবিপ্রবি

চুরির তদন্তে সাত সদস্যের কমিটি গঠন করলো বশেমুরবিপ্রবি



সুমন,বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি ঃ একুশে ফ্রেবুয়ারি লাইব্রেরি ভবন থেকে কম্পিউটার চুরির ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করতে কমিটি গঠন করেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়( বশেমুরবিপ্রবি)। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার প্রফেসর ড. মোঃ নূরউদ্দিন আহমেদ খবরটি নিশ্চিত করেছেন।


আইন অনুষদের ডিন মোঃ আব্দুল কুদ্দুস মিয়াকে সভাপতি করে সাত সদস্যের এই কমিটি গঠন করা হয়েছে।এতে সদস্য সচিব পদে আছে বশেমুরবিপ্রবি রেজিস্টার মহোদয়।


কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন,প্রফেসর ড. মোঃ আবদুর রহিম( ডিন বিজ্ঞান অনুষদ),এসএম এস্কান্দার আলী(প্রকৌশলী, বশেমুরবিপ্রবি), মোঃ নজরুল ইসলাম(সহকারী রেজিস্টার)  এবং মোঃ নাছিরুল ইসলাম( ভারপ্রাপ্ত লাইব্রেরিয়ান)।


তদন্ত কমিটিকে সাত কর্ম দিবসের মধ্যে সুপারিশসহ প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছ। সেই সঙ্গে ঈদ- উল- আযহার ছুটি থাকাকালীন দায়িত্বপ্রাপ্ত গার্ডগন কেউ কেউ অনুনোমোদিত ছুটি ছিলেন তারা কেন এমনটি করলেন এ বিষয়টিও কমিটিকে তদন্ত করতে বলা হয়েছে।

হবিগঞ্জ জেলায় মটর মালিক গ্রুপের বাসভাড়া সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত

 হবিগঞ্জ জেলায় মটর মালিক গ্রুপের বাসভাড়া সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত



লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি 


হবিগঞ্জ-সিলেট রুটে বাসভাড়া সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে হবিগঞ্জ মটর মালিক গ্রুপ। রোববার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হবিগঞ্জ মটর মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক শুভ্র শংক রায়।

করোনা সংক্রামণ রোধে দীর্ঘদিন পরিবহণ বন্ধ থাকার পর পূণরায় চালু হয়। এ সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রীবাহি পরিবহণ চলাচালের ক্ষেত্রে বেশ কিছু নির্দেশনা দেয় সরকার।


এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়া হয় শারিরীক দূরত্বের বিষয়টিকে। সরকার থেকে বলা হয় শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে এক সিট ফাঁকা রেখে যাত্রী পরিবহণ করতে হবে। এক্ষেত্রে ৬০ শতাংশ ভাড়া বেশি নেয়ার অনুমতিও দেয়া হয়। ফলে হবিগঞ্জ-সিলেট রুটে ১৪৫ টাকার পরিবর্তে ভাড়া নির্ধারণ করা হয় ২৩৫ টাকা।


তবে সম্প্রতি এ রুটের পরিবহণগুলো ২৩৫ টাকা ভাড়া নিলেও কোন সিট ফাঁকা না রেখেই যাত্রী পরিবহণ করে আসছে। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় বাস শ্রমিক ও যাত্রীদের মধ্যে তর্ক-বিতর্কের সৃষ্টি হয়। বিষয়টি সমাধানের জন্য উদ্যোগ নেয় হবিগঞ্জ মটর মালিক গ্রুপ।


এ সময় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়- কোন যাত্রী যদি এক সিট ফাঁকা রেখে বসতে চান তাহলে তাকে ২৩৫ টাকা ভাড়া গুণতে হবে। তবে যদি কোন সিট ফাঁকা না রেখে দুইজনে সমন্বয় করেন তাহলে পূর্বের ভাড়া ১৪৫ টাকাই নেয়া হবে।


এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ মটর মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক শুভ্র শংক রায় বলেন- ‘সরকারি নির্দেশনার বাহিরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই। তাই সরকারি নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করেই বাস চলাচল করবে। তবে যেসব যাত্রীরা সমন্বয় করে পাশাপাশি বসতে পারবেন তাদের কাছ থেকে পূর্বের ভাড়া নেয়া হবে। আর যদি পাশের সিট ফাঁকা রাখতে চান তাহলে তাকে বর্তমান ভাড়া ২৩৫ টাকা দিতে হবে।


তিনি আরও বলেন- এ ব্যাপারে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিবহণ সংশ্লিষ্টদের জানিয়ে দেয়া হয়েছে। সোমবার ১০/৮/২০২০ থেকে এ নির্দেশনা কার্যকর হবে।

নবীগঞ্জের প্রতিটি গ্রম গঞ্জে চলছে রমরমা সুদের ব্যাবসা

নবীগঞ্জের প্রতিটি গ্রম গঞ্জে চলছে রমরমা সুদের ব্যাবসা



মোঃ নাসির চৌধুরী তানভীর, নবীগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি। 

নবীগঞ্জ উপজেলার প্রতিটি গ্রাম গঞ্জে  ছড়িয়ে পড়েছে সুদখোরদের ছড়াছড়ি ভিটামাটি ছাড়া হয়েছেন অনেক অগণিত পরিবার। আজ কাল গ্রামের তো আছেই বাজারে বসে ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানের নাম করে দোকান খুলে বসেছেন অনেক সংখ্যা সুদখোর ব্যাবসায়ী তাদের আসল মতলব হল সুদ টাকা নাড়াচাড়া।সুদের টাকা পরিশোধ না করলে চলে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। 


একজন ভুক্ত ভুগী জানান, গ্রাম ও বাজারের সুদ খুরেরা ১০০০ টাকায় এক মাস পরে ১২০০টাকা নেয়।


একজন ফিন্যান্স এর ছাত্র বলেন,আমরা লেখাপড়া করসি ১০০ টাকা এক বছর পর ভবিষ্যত মূল্য ১১০ টাকা।কিন্তু গ্রাম অঞ্চলে ১০০ টাকার এক বছর পর ভবিষ্যৎ মূল্য ৩৪০ টাকা।গ্রাম আঞ্চলে ২৪০% সুদে লেনাদেনা করা হয়।এর মধ্যে আবার কারো কারো মাসিক ২৪০% চক্রবিদ্র সুদে।


মুসলমান দের ধর্মগ্রন্থ আল কোরআনে সুদ কে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।


যারা সুদ খায় তাদের অবস্থা হয় ঠিক সেই লোকটির মতো যাকে শয়তান স্পর্শ করে পাগল করে দিয়েছে৷ তাদের এই অবস্থায় উপনীত হবার কারণ হচ্ছে এই যে, তারা বলেঃ “ ব্যবসা তো সুদেরই মতো ৷” অথচ আল্লাহ ব্যবসাকে হালাল করে দিয়েছেন এবং সুদকে করেছেন হারাম ৷ কাজেই যে ব্যক্তির কাছে তার রবের পক্ষ থেকে এই নসীহত পৌছে যায় এবং ভবিষ্যতে সুদখোরী থেকে সে বিরত হয়, সে ক্ষেত্রে যা কিছু সে খেয়েছে তাতো খেয়ে ফেলেছেই এবং এ ব্যাপারটি আল্লাহর কাছে সোপর্দ হয়ে গেছে ৷ আর এই নির্দেশের পরও যে ব্যক্তি আবার এই কাজ করে , সে জাহান্নামের অধিবাসী ৷ সেখানে সে থাকবে চিরকাল ৷(আল বাকারাহ,আয়াতঃ২৭৫)


হে ঈমানদারগণ ! আল্লাহকে ভয় করো এবং লোকদের কাছে তোমাদের যে সুদ বাকি রয়ে গেছে তা ছেড়ে দাও , যদি যথার্থই তোমরা ঈমান এনে থাকো।(আল বাকারাহ,আয়াতঃ২৭৮)।


হিন্দুধর্মে ‘মনু’ এর (২য় শতাব্দী এডি) বিধিমালায় সুদের লেনদেন অবৈধ বা নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। প্রাচীন হিন্দু সমাজে একটি প্রবাদ চালু ছিল যে, ‘নগচ্ছেৎ শুন্ডিকায়লং’; অর্থাৎ সুদখোরের বাড়িতে যেয়ো না।


 বৌদ্ধ ধর্মেও সুদকে ঘৃণা করা হয়েছে এবং সুদখোরদের ‘ভ- তপস্বী’ বলে আখ্যায়িত করা হয়েছে। বলা হয়েছে, ‘যুঢ়ড়পৎরপধষ ধংপবঃরপং ধৎব ধপপঁংবফ ড়ভ ঢ়ৎধপঃরপরহম রঃ.’ 


প্রাচীন গ্রীক দার্শনিক প্ল্যাটো তার ‘লজ’ নামক পুস্তকে সুদকে মানবতাবিরোধী, অন্যায় ও জুলুম এবং কৃত্রিম ব্যবসা বলে তীব্রভাবে বিরোধিতা করেছেন’। প্ল্যাটোর শিষ্য এরিস্টোটলও কঠোর ভাষায় সুদের নিন্দা ও বিরোধিতা করেছেন।


এই মহামারির এই দিনে গরিবরা কোথাও ঋন না পেয়ে গিয়ে সুদের সম্মুখীন হয়।তার একমাস পর থেকেই তাদের উপর চলে অমানবিক অত্যাচার। অনেকেই বাসা বাড়ী চারতে বাধ্য হন।এ সুদি লেনদেনের কারনে অনেকের ই বাড়ী বিক্রি করে চলে যেতে হয়েছে ভোলাগঞ্জ, বিশ্নাকান্দি,চট্টগ্রাম, বরিশাল সহ বিভিন্ন জায়গায়।

কালিগঞ্জ-জীবননগর মহা-সড়কে বাসের চাপায় পিষ্ট হয়ে এক দিনমজুর নিহত

কালিগঞ্জ-জীবননগর মহা-সড়কে বাসের চাপায় পিষ্ট হয়ে এক দিনমজুর নিহত


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ ১০ আগস্ট বেলা সাড়ে ১১ টার সয়ম ঝিনাইদহের কালিগঞ্জ-জীবননগর মহা-সড়কের মেসার্স লিমা ফিলিং স্টেশনের পাশে ঝিনাইদহ জেলার শেষ সিমানা জোড়া মাইল নামকস্থানে কালিগঞ্জ থেকে ছেড়ে আশা অয়ন পরিবহন ( যাত্রী বাহী বাস) চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার হাসাদাহ মাঝপাড়ার মৃতঃ-গোলাম মন্ডলের ছেলে মোলি মন্ডল (৬০)কে চাপা দেয়। এঘটনায় মোলি মন্ডল ঘটনাস্থলে নিহত হয়েছে। খবর পেয়ে মহেশপুর এবং জীবননগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থ উপস্থিত হয়েছে। এবং মহা-সড়কের এরিয়া স্থানটি ঝিনাইদহ জেলা সিমানায় মধ্যে পড়ায় মহেশপুর পুলিশ লাসটি উদ্ধার করে ঝিনাদহের মর্গে পাঠিয়েছে। 


প্রতাক্ষ দর্শিরা জানান মোলি মন্ডল রাস্তার পাশের জমিতে কাজ করছিল। এবং ঐ সময় সে রাস্তার পাশে বসে ভাত খাচ্ছিল, এমতাবস্থায় কালিগঞ্জ থেকে ছেড়ে আশা  অয়ন পরিবহন একটি ট্রাক্টরকে সাইড দিতে গিয়ে তাকে চাপা দেয়। এতেই সে ঘটনাস্থলে রাস্তায় পিষ্ট হয়ে যায়। নিহতের শরীরের মাথা থেকে বুক পর্যন্ত সমস্ত অংশ একেবারে ছিন্ন বিন্ন হয়ে পিষে গেছে, তার চেনার মত কোন আকৃতি নেই।

মোংলায় মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ২২ জনকে আর্থিক জরিমানা।

মোংলায় মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ২২ জনকে আর্থিক জরিমানা।



মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা 

মোংলায় আজ সোমবার দুপুরে মামার ঘাট সংলগ্ন চৌধুরীর মোড় এলাকায় মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে মাক্স ব্যাবহার না করা,ও মোটরসাইকেল এর প্ররোজনীয় কাগজপত্র না  থাকায় ২২ব্যাক্তিকে আর্থিক জরিমানা করা হয়েছে।    


এ বিষয়ে জানতে চাইলে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কারী কর্মকর্তা মোংলা উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি নয়ন কুমার রাজবংশী বলেন মোংলা উপজেলা প্রশাষন ও নৌ কন্টিনজেন্ট মোংলা এর সহোযোগিতায়    করোনা ভাইরাস এর হাত থেকে মোংলার জনসাধারণকে রক্ষা করতেই আমাদের এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা।কেউ যেন মাস্ক ছাড়া চলাফেরা না করে।সবাই যেন মাস্ক ব্যাবহার করে এজন্য সবাইকে সচেতন করাই আমাদের মূল উদ্দেশ্যে ।এ আইন অমান্য করায় (মাস্ক ব্যবহার না করা,ও মোটরসাইকেল এর প্ররোজনীয় কাগজপত্র না থাকায়) ২২জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়, মামলায় জরিমানা স্বরূপ ২২ জনের কাছ থেকে ৫১০০ টাকা আদায় করা হয়।


এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন লেফটেন্যান্ট রাকিব সহ মোংলা নৌ কন্টিনজেন্ট এর সদস্য বৃন্দ।

ঝিকরগাছায় ছাত্রলীগ নেতার মায়ের মৃত্যু,শোক প্রকাশ

ঝিকরগাছায় ছাত্রলীগ নেতার মায়ের মৃত্যু,শোক প্রকাশ




মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত, ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঝিকরগাছা উপজেলা শাখার অন্তর্গত ০৬ নং ঝিকরগাছা সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ন-আহ্বায়ক মোঃ ওসমান গণির মাতা ১০জুলাই ভোর ৫:০০ ঘটিকার সময় নওদাপাড়া গ্রামের নিজ বাসভবনে  ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাহি রাজিউন)।


মোঃ ওসমান গণির মাতার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ ও শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন ঝিকরগাছা উপজেলা ও ঝিকরগাছা পৌরসভা ছাত্রলীগ।

খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা

খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা



তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা প্রতিনিধিঃ

আজ খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয় জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা। সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেন মহোদয়ের সভাপতিত্বে এই সভায় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার, খুলনা জনাব এস এম শফিউল্লাহ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোঃ ইউসুপ আলী,  কেএমপির পুলিশ উপ-কমিশনার জনাব এম. এম. শাকিলুজ্জামান। উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণসহ  সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ Zoom Cloud এ সংযুক্ত ছিলেন।


সভায় জেলার সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়।

দেড়মাস অতিবাহিত হলেও নব-বধূর মৃত্যুরহস্য এখন ও অন্ধকারে

দেড়মাস অতিবাহিত হলেও নব-বধূর  মৃত্যুরহস্য এখন ও অন্ধকারে



মোরশেদ আলম 

যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি

যশোর কেশবপুরে যৌতুকের শিকার নব-বধূ সালমা খাতুনের মৃত্যুরহস্য এখন ও উন্মেচিত হয়নি। সালমা খাতুনের পিতার অভিযোগ হত্যা আর স্বামীর অভিযোগ হচ্ছে আত্নহত্যা। মৃত্যুরহস্য অন্ধকারেই রয়েগেছে।

এলাকাবাসি সূত্রে জানাগেছে, কেশবপুর উপজেলার গোপসেনা গ্রামের মোসলেম গাজীর পূত্র ওমর ফারুক (৪২) এর সাথে গত ১ জুন মণিরামপুর উপজেলার পারখাজুরা গ্রামের মজিবার রহমানের কন্যা সালমা খাতুন (২৫) এর বিবাহ সম্পন্ন হয়। যে বিবাহ ওমর ফারুকের প্রথম স্ত্রী রাশিদা বেগম (৩৬) ও তার পূত্র সুমন (২০) মেনে নেয়নি। বিবাহের পর থেকে যৌতুকের দাবীতে তারা প্রায়ই নব-বধূ সালমার উপর অমানুষিক নির্যাতন চালাতো । বিবাহের মাত্র ২৪ দিনের মাথায় গত ২৪ জুন ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় সালমা খাতুন এর লাশ পাওয়া যায়। স্থানীয় চিংড়া পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এস আই দীপক দত্ত সালমা খাতুনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর মর্গে প্রেরণ করেন। সেই থেকে স্বামী ওমর ফারুক, তার প্রথম স্ত্রী রাশিদা বেগম ও পূত্র সুমন পলাতক রয়েছে।

মৃত সালমা খাতুনের পিতা মজিবার রহমানের অভিযোগ, যৌতুকের দাবী পূরণ করতে না পারায় তার জামাই ওমর ফারুক, তার প্রথম স্ত্রী রাশিদা বেগম ও পূত্র সুমন মিলে তার মেয়েকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে দিয়ে এলাকায় আত্নহত্যার অপপ্রচার চালিয়েছে। তার মেয়েকে মেরে ফেলা হয়েছে, তাই যদি না হবে তাহলে বাড়ীর লোকজন সব পালিয়েছে কেন? তিনি আইনের মাধ্যমে তার মেয়ে হত্যার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।


গঙ্গানন্দপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

গঙ্গানন্দপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা




স্টাফ  রিপোর্টারঃ গঙ্গানন্দপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত। জানা যায় আগামী ১৫ ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উদযাপন  উপলক্ষে আজ (১০ই আগস্ট) যশোর জেলার গঙ্গানন্দপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের অফিস কক্ষে সকাল ৯.৩০ ঘটিকার সময় বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ এর সম্মানিত সভাপতি মোঃ আমিনুর রহমান এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। 

উক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ শাজ্জাদুল ইসলাম,পরিচালনা পর্ষদ এর শিক্ষানুরাগী সদস্য প্রভাষক মোঃ মহসীন আলী, সদস্য মোঃ বিপ্লব হোসেন,মোঃ কামরুজ্জামান, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, মোঃসামসুর রহমান,মোছাঃ শিউলি আক্তার,শিক্ষক প্রতিনিধি মোঃ জহুরুল ইসলাম,  ছবি রানী ঘোষ,মোঃ কামরুজ্জামান, ক্রীড়া শিক্ষক মোঃ আব্দুস সোবহান, অফিস সহকারী মোঃ রফিকুল ইসলাম  প্রমুখ।

চুরিবিদ্যার নেপথ্যে আসলে দায়ী কে?

চুরিবিদ্যার নেপথ্যে আসলে দায়ী কে?




সুমন,বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি ঃইংরেজী  thief শব্দের বাংলা প্রতিশব্দ চোর। এক অক্ষরে গঠিত শব্দটি নেতিবাচক অর্থেই প্রয়োগ করা হয়।কিন্তু কেন একজন স্বাভাবিক মানুষ চোর হয়ে ওঠেন?


সৃষ্টির সেরাজীব মানুষ।আশরাফুল মাখলুকাত খ্যাত মানবরা কেন অপকটে সিধ কেটে,জানালা ভেঙে বা ছিনতাই করে চুরি করে?কেন বিবেক বাধা দেয়না তাকে।


অবশ্যই সাহিত্যসম্রাট বঙ্কিমচন্দ্র বলেন,খাইতে পাইলে চোর কে হয়? চোর অপেক্ষা কৃপন ধনী শতগুণে দোষী।


জীবিকার তাগিদে,অর্থের সংকটে,ধর্মের অপব্যাখ্যায়, পিতামাতার অসচেতনতা,কিশোর অপরাধ,মাদকাসক্তি বা অন্যান্য কারনে চোরের সৃষ্টি হয় বলে বিভিন্ন জরিপে জানা যায়।তবে বড় ধরনের চুরির পেছনে থাকতে পারে স্বার্থান্বেষী মহলের হাত।সে যাই হোক চোর সমাজের পথভ্রষ্ট ব্যক্তি সেটা সবাই স্বীকার করবে।


শিক্ষা চোর,গৃহ চোর,মেস চোর,বউ চোর, টাকা চোর,কম্পিউটার চোর এমন আরো নানাবিধ চোরের দর্পন সমাজে বিদ্যমান।


আইনের শাসন কড়া প্রয়োগ করলে চুরি বিদ্যা কিছুটা কমতে পারে।তবে চুরির নেপথ্যে বড় মহল থাকলে অর্থা ঘরের শত্রু বিভীষণ হলে সহজে চোর সাজা যায়।

কিশোরগঞ্জে তিনদিন ধরে বিদ্যুতের লুকোচুরি

কিশোরগঞ্জে তিনদিন ধরে বিদ্যুতের লুকোচুরি



মো: লাতিফুল  আজম,কিশোরগঞ্জ  নীলফামারী প্রতিনিধিঃ নেসকো বাংলাদেশ লিমিটেড (পিডিবি)র লুকোচুরির কারণে গত তিন দিন ধরে বিদ্যুত বিহীন অবস্থায় রয়েছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার প্রায় সাত হাজার গ্রাহক।


গত দুই দিন মাঝে মাঝে বিদ্যুতের আসা যাওয়া থাকলে শুক্রবার সকাল ৭ টা থেকে এ রিপোট লেখা পযর্ন্ত বিদ্যুৎ আসেনি। ফলে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ সাধারণ গ্রাহকরা।


পিডিবি অফিস সূত্রে জানা গেছে, নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় আবাসিক অনাবাসিক মিলে মোট সাত হাজার গ্রাহক রয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী এ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুৎ পাওয়া কথা থাকলেও দফায় দফায় বিদ্যুৎ বিভ্রাটে নাকাল হচ্ছে মানুষ। গত দুই দিন থেকে দিনের বেলা এক ঘণ্টা পরপর বিদ্যুতের দেখা মিললেও শুক্রবার সকাল ৭টা পর্যন্ত এ রিপোট লেখা পর্যন্ত বিদ্যুতের দেখা মেলেনি।


কিশোরগঞ্জ বাজারের হোটেল ব্যবসায়ী বজলার রহমান জানান, সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী এ উপজেলাকে শতভাগ বিদ্যুৎ কেন্দ্র উপজেলা ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু সামান্য বৃষ্টি হলে বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন টালবাহানা শুরু করে ফলে বিদ্যুৎ না থাকায় ব্যবসায়ীক ভাবে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি।


কিশোরগঞ্জ ডাকবাংলো এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা সুজাউদ্দৌলা জানান, বিদ্যুতের লুকোচুরির কারণে বাসায় ব্যবহারিত বৈদ্যতিক যন্ত্রপাতি নষ্ট হওয়ার উপক্রম।


নেসকো বাংলাদেশ লিমিটেড কিশোরগঞ্জ উপজেলার আবাসিক প্রোকৌশলী আশিকুর রহমানের মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলে তাঁর মোবাইলটি বন্ধ পাওয়া যায়।


ইউএনও আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমি শুনেছি বিদ্যুতের ৩৩ হাজার কেভির লাইনে ত্রটি দেখা দেওয়ার কারণে বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ রয়েছে।

তারাকান্দা উপজেলা প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে নুরুজ্জামান সরকার বকুল মাষ্টারের জন্মদিন পালিত

 তারাকান্দা উপজেলা প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে নুরুজ্জামান সরকার বকুল মাষ্টারের জন্মদিন পালিত



স্টাফ রিপোর্টার : আর.জে মিজানুর রহমান ইমন : 


তারাকান্দা উপজেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক ও তারাকান্দা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এবং জাতীয় সাংবাদিক ঐক্য ফোরাম ময়মনসিংহ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক, সৎ, নির্ভিক, জনদরদি আলোকিত মানুষ গড়ার কারিগর প্রধান শিক্ষক মধুপুর মডেল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, সাংবাদিক  মোঃ  নুরুজ্জামান সরকার (বকুল মাষ্টার) এর জন্মদিন, তারাকান্দা উপজেলা প্রেস ক্লাব হল-রুমে পালিত হয়েছে । ১৯৭৬ সালের আজকের এই দিনে তিনি ময়মনসিংহ জেলার তারাকান্দা উপজেলার ১নং সদর ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামে জন্ম গ্রহন করেছেন । তিনি ১৯৮৭ সাল থেকে "ভাষা সৈনিক ৫বার নির্বাচিত এম.পি মরহুম শামছুল হক"  সাহেবের দীক্ষা নিয়ে তিনি আজও সামাজিক কল্যাণে দেশের সেবায় জন প্রতিনিধি হয়ে কাজ করছেন, ব্যাক্তিগত জীবনে তিনি এক ছেলে এক মেয়ের বাবা, স্ত্রী কামরুন নাহার সিনিয়র শিক্ষক তারাকান্দা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় । 


উক্ত আয়োজনে, প্রথমে তাকে স্থানীয় রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেত্ববৃন্দরা ফুলের শুভেচ্ছা ও গলায় মালা বরণ করে নেয় । আয়োজনে শেষে সকলের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয় । 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় সাংবাদিক ঐক্য ফোরাম ময়মনসিংহ জেলা কমিটির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক, সাংবাদিক ফজলে এলাহী ঢালি, সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ তারাকান্দা উপজেলা কমিটির সভাপতি বাবুল চন্দ্র সূত্রধর সরকার, তারাকান্দা তরুণ যুব সংঘ পরিবারের সভাপতি ও জাতীয় সাংবাদিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তারাকান্দা উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক, সাংবাদিক আর.জে মিজানুর রহমান ইমন, হারুণ মেম্বার, সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ তারাকান্দা উপজেলা কমিটির সহ-সভাপতি আজগর আলী, সাধারণ সম্পাদক দুলাল মিয়া, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হোসাইন আহমাদ রেজা, তারাকান্দা তরুণ যুব সংঘ পরিবারের সহ-সম্পাদক মোঃ মাহফুজুর রহমান আকাশ, মনিরুজ্জামান মিয়া, মোঃ সুমন সরকার, ইউসুফ আলী, সাইদুর রহমান, মোঃ সোহেল মিয়া প্রমুখ ।

নেত্রকোনায় নৌডুবি নিহত ১৮ পরিবারের সন্তানদের লেখাপড়ার দায়িত্ব নিতে চান,আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ

নেত্রকোনায় নৌডুবি নিহত ১৮ পরিবারের সন্তানদের লেখাপড়ার দায়িত্ব নিতে চান,আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ



এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফঃ নেত্রকোনায় উচিতপুরে গত ৫ আগষ্ট নৌকাডুবিতে ময়মনসিংহে সদরের সিরতা ইউনিয়নের ১৮জন নিহতদের পরিবারের সন্তানদের লেখাপড়ার দায়িত্ব নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন দেশের বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন, শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্রান্ড ইমাম,ইসলাহুল মুসলিমীন পরিষদ বাংলাদেশের চেয়ারম্যান, আলেম মুক্তিযোদ্ধা "আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ"। 

তিনি জানান, শোকে কাতর পরিবারগুলোর। মাদ্রাসার ছাত্র, শিক্ষক নিহত হওয়ায় পরিবারের অসহায়ত্বের কথা ভেবে তাদের পাশে দাড়ানো সাধ্যমত সহায়তা করা নৈতিক দায়িত্ব। সেই চিন্তা করে নিহতদের পরিবারের থেকে কেউ লেখাপড়া করার সামর্থহীনদের ৩ বছর লেখাপড়ার যাবতীয় দায়িত্ব নিয়ে শিক্ষা গ্রহণের সহায়তা প্রদানে সুযোগ দিতে চান সামাজিক সংগঠন ইসলাহুল মুসলিমীন পরিষদ বাংলাদেশ। আলেম মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম ফোরামের সভাপতি মাও. সদর উদ্দিন মাকনুন তিনি এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং সকলকে সাধ্যমত সহায়তা প্রদান করে পরিবারের পাশে দাড়ানোর আহ্বান জানান।