পিরোজপুরে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের ৭ নম্বর মহাবিপদ সংকেত!

পিরোজপুরে ঘূর্ণিঝড়  আম্ফানের ৭ নম্বর মহাবিপদ সংকেত!

মিঠুন কুমার রাজ,
পিরোজপুর জেলা প্রতিনিধি।
মহামারী করোনা, সেই দুর্যোগ কাটিয়ে না উঠতে ঘূর্ণিঝড়  আম্ফানের পূর্বাভাস  ভাবিয়ে তুলেছে উপকুলবাসিকে । এই মহাদুর্যোগের সময়ে আবার আরেকটি ঘূর্ণিঝড় “আম্ফান” ধেয়ে আসছে আমাদের দিকে। আগামী ১৯-২০ মে আঘাত হানতে পারে ভোলাসহ উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে। বর্তমানে আমাদের ভোলা জেলাকে ৭নং বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

বুধবার (২০ মে) বিকাল থেকে সন্ধ্যার মধ্যে আম্ফান পশ্চিমবঙ্গের দীঘা এবং বাংলাদেশের হাতিয়ার মাঝামাঝি এলাকা অথাৎ ভোলা জেলার উপর দিয়ে উপকূল অতিক্রম করতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে ভারতের আবহাওয়া বিভাগ।

ভারতের আবহাওয়া অফিস বলছে, এ ঝড় আরও শক্তিশালী হয়ে সুপার সাইক্লোনে পরিণত হতে পারে, তখন এর বাতাসের গতি ঘণ্টায় ২৬৫ কিলোমিটার পর্যন্ত পৌঁছাতে পারে। তবে উপকূলে পৌঁছনোর আগে সামান্য কমে আসতে পারে এর শক্তি। 

ঘূর্ণিঝড় এবং অমাবস্যার প্রভাবে উপকূলীয় জেলা  ভোলা, বরিশাল, পটুয়াখালী, ঝালকাঠি,( পিরোজপুর ), বরগুনা, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম,  সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট ও তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ এবং চরসমূহের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪ থেকে ৫ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

মিরসরাই ৭৫০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ

মিরসরাই ৭৫০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ


মিরসরাই প্রতিনিধি:
মিরসরাই উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা চেয়ারম্যানের উদ্যোগে ৭৫০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার (১৮ মে) উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভায় এ ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয়। ইফতার সামগ্রীর মধ্যে ছিলো চাউল, চিনি, সেমাই, গুড়ো দুধ। 
জানা গেছে, মিরসরাই উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে ৪৫০০ প্যাকেট ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জসিম উদ্দিনের ব্যক্তিগত উদ্যোগে ২৫০০ প্যাকেট ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এছাড়া উপজেলা চেয়ারম্যানের উদ্যোগে উপজেলার বিভিন্ন জামে মসজিদের ৩৬০ জন ইমাম-মুয়াজ্জিনের মাঝেও ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এসময় বিভিন্ন দপ্তরের সরকারী কর্মকর্তা, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র, আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জসিম উদ্দিন বলেন, করোনা ভাইরাসের মহামারির কারণে উপজেলার হতদরিদ্র ও মধ্যবিত্ত পরিবারগুলো কষ্টে দিনযাপন করছে। ইতমধ্যে আমাদের অভিভাবক সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি’র ব্যক্তিগত উদ্যোগে ২ পর্বে ১২ হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সরকারী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রয়েছে। আজ উপজেলা পরিষদ ও আমার ব্যক্তিগত উপজেলার ৭৫০০ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন মসজিদের ইমাম-মুয়াজ্জিনদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। সমাজের এ শ্রেণীর মানুষ সব সময় উপেক্ষিত থাকে। সমাজের বিত্তশালী সকলের উচিত অসহায় মানুষদের সহায়তায় এগিয়ে আসা।

কুমিল্লার হোমনায় জামাতার হাতে শ্বশুর খুন

কুমিল্লার হোমনায় জামাতার হাতে শ্বশুর খুন


শাহ আলম জাহাঙ্গীর
কুমিল্লা ব্যুরো

কুমিল্লার হোমনায় উকিল জামাতার হাতে শ্বশুর খুন হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 
১৮ই মে সোমবার ভোর রাতে উপজেলার দুলালপুর ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামে এ হত্যাকান্ড ঘটে। এতে মো. নজরুল ইসলাম (৫৫)নিহত হয়েছে এবং তার ভাই মো. রফিকুল ইসলামকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে ।
উভয়ই জয়নগর গ্রামের মৃত আঃ মজিদের ছেলে । অপর দিকে ঘাতক মো. বসির উদ্দীন (৪০) তার উকিল মেয়ের জামাতা।সে একই বাড়ির মৃত আঃ বারেকের ছেলে। ঘটনার পর খুনি বসির উদ্দিন ও তার মা রেনু বিবি কে আটক করে পুলিশে দিয়েছে গ্রামবাসি ।
হোমন থানা পুলিশ সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের স্বজনরা জানায়, ঘাতক বাসির উদ্দিন ৭/৮ বছর আগে হোমনা পূর্ব পাড়ায় গ্রামের এক মেয়ের সাথে তার বিবাহ হয়। এ বিয়ের উকিল ছিল নিহত মো. নজরুল ইসলাম । মো. বসির উদ্দিন কোন কাজ কর্ম করতো না এ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ হতো এবং তার মা ছেলের বউকে নির্যাতন করতো এ নিয়ে ইসলাম বসিরের মাকে বিভিন্ন সময়ে  গালমন্দ করতো।
 গত বছর পাঁচ লক্ষ টাকার বিনিময়ে তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায় । ঘাতক বসির উদ্দিনের ধারনা তার উকিল শ্বশুর নজরুল ইসলামের কারনে তার বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটেছে । এর পর থেকে মাকে শাসানোর প্রতিশোধ নেয়ার জন্য তাকে হত্যার পরিকল্পনা করে সে।

আজ সোমবার ভোর রাতে সেহেরী খাওয়ার সময় খুনি বশির উদ্দিন তার উকিল শ্বশুর নজরুল ইসলামের ঘরের দরজা খুলতে বলে । নজরুল ইসলাম দরজা খোলার সাথে সাথে কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই তার হাতে থাকা ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকে । তাকে বাঁচাতে তার ছোট ভাই রফিকুল ইসলাম(৪২) এগিয়ে এলে তাকেও কুপিয়ে আহত করে। সকালে তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার ইসলামকে মৃত ঘোষনা করে এবং রফিকুল ইসলামকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ করে ।

এ বিষয়ে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবুল কায়েস আকন্দ জানান, এ ঘটনায় ঘাতক বাসির উদ্দিন ও তার মা রেনু বিবিকে  গ্রেফতার করা হয়েছে । মৃতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।আসল রহস্য উদঘাটন করতে পুলিশ কাজ করছে ।

ছাত্রদল নেতার ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ

ছাত্রদল নেতার ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টারঃ   করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের জন্য সমগ্র মহাবিশ্ব যখন লকডাউনে কবলে তখন যশোর সদর উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নের ছাত্রদল নেতা মোঃ ইব্রাহিম হোসেন মিন্টু তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে অসহায় গরিব দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সহায়তা করেন। এ
প্রিয় নেতা আলহাজ্ব অনিন্দ্য ইসলাম অমিত ভাইয়ের নির্দেশে দেয়াড়া ইউনিয়ন ছাত্রদল নেতা মোঃ ইব্রাহিম হোসেন মিন্টু ১২০ টি পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন। এ সময় ইউনিয়নের বি এন পির যুবদলের  বিভন্ন পর্যায়ে নেতা কর্মী সাথে ছিলেন।

দুস্থ ও অসহায়দের রান্না করা খাবার দিল রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রাম

দুস্থ ও অসহায়দের রান্না করা খাবার দিল রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রাম


রিয়াজুল করিম রিজভী প্রতিনিধি চট্টগ্রামঃ-

করোনা ভাইরাস পরিস্থিতে প্রতিনিয়ত সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে রেড ক্রিসেন্ট, চট্টগ্রাম। পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষ্যে দুস্থ ও অসহায় মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আজ ১৮ মে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি চট্টগ্রাম জেলা ও সিটি ইউনিটের উদ্যোগে যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের বাস্তবায়নে যুব রেড কার্যালয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে দুস্থ, অসহায় ও পথচারীদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়। উক্ত কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ম্যানেজিং সোসাইটির ম্যানেজিং  বোর্ড সদস্য ও জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের ভাইস চেয়ারম্যান ডাঃ শেখ শফিউল আজম। যুব রেড ক্রিসেন্ট, চট্টগ্রামের যুব প্রধান মোঃ ইসমাইল হক চৌধুরী ফয়সাল এর নেতৃত্বে চকবাজার থানায় দায়িত্বরত পুলিশদের জন্য ইফতার প্রেরণ করা হয়। এছাড়াও করোনা ভাইরাস সচেতনতায় মাইকিং কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আন্দরকিল্লা, চকবাজার, ফুলতলা, কাতালগঞ্জ, ডিসি রোড, পাচঁলাইশ, বাদুরতলা এলাকায় পরিচালনা করা হয়।
উক্ত কার্যক্রম সমূহে উপস্থিত ছিলেন জেলা রেড ক্রিসেন্টের ইউনিট লেভেল অফিসার আবদুর রশিদ খান, সিটি রেড ক্রিসেন্টের ইউনিট লেভেল অফিসার মুহাম্মদ ইয়াহইয়া বখতিয়ার, যুব রেড ক্রিসেন্ট, চট্টগ্রামের দপ্তর বিভাগীয় প্রধান আ.ন.ম তামজীদ, সিনিয়র যুব সদস্য জৌর্তিময় ধর, কার্যকরী পর্ষদ সদস্য ও যুব স্বেচ্ছাসেবকরা।

পথচারীদের মধ্যে খাবার বিতরণ শ্রেষ্ঠ ইবাদত : রেজাউল করিম চৌধুরী

পথচারীদের মধ্যে খাবার বিতরণ শ্রেষ্ঠ ইবাদত : রেজাউল করিম চৌধুরী



রিয়াজুল করিম রিজভী প্রতিনিধি চট্টগ্রামঃ-

অনাহারীর মুখে আহার ও রোজাদারের মুখে ইফতারী তুলে দেয়ার মতো বড় ইবাদত দুনিয়াতে নেই। সুবিধাবঞ্চিত পথচারীদের মধ্যে ইফতার বিতরণের মধ্য দিয়ে তাদের হাসি ফোটানো গেলেই প্রকৃত মানবিক ধর্ম পালন করা হবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. রেজাউল করিম চৌধুরী ।

নগরীর বন্দর থানা এলাকায় পথচারী, ফুটপাতের অসহায় ও দু:স্থদের মাঝে স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্দ্যোগে ইফতার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

এসময় তিনি আরও বলেন, দেশের একজন মানুষ ও যেনো অভুক্ত না থাকে সেজন্য তিনি সরকারীভাবে উদ্যোগ গ্রহন করাসহ মানুষের পাশে থাকতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা কাজ করে চলেছেন, মানুষের পাশে আছেন। তিনি উপস্থিত সকলকে সরকারী নির্দেশনা পালনের পাশাপাশি আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হওয়ার আহবান জানান। 

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক এ্যাডভোকেট এ. এইচ. এম. জিয়া উদ্দিন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক কে বি এম শাহ জাহান, যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ সালাউদ্দিন, ৩৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জিয়াউল হক সুমন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মোঃ হোসেন চৌধুরী সাদ্দাম, আফতাব উদ্দিন, বন্দর থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা  মিজানুর রহমান সজল, ছাত্রলীগ নেতা সাকিব চৌধুরী, সালাউদ্দিন সজীব, নাজমুল,খোকন, ফাহিম, শামীম ওসমান, রিদুয়ান, আসলাম,সজিব, মাছুম প্রমুখ।

ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ সতর্কতায় কয়রা উপকূলে মাইকিং, খুলেছে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ

ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ সতর্কতায় কয়রা উপকূলে  মাইকিং, খুলেছে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ


কয়রা খুলনা প্রতিনিধিঃ  :-উপকূলের দিকে ধেয়ে আসা ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ এর সম্ভাব্য আঘাত মোকাবেলায় বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণে  উপকূলীয় কয়রা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। এলাকাবাসীকে এ ঘূর্ণিঝড়ের সতর্কতা জানিয়ে উপজেলার  তীরবর্তী অঞ্চলে মাইকিং করা হচ্ছে ও  উপজেলা প্রশাসনের ঘূর্ণিঝড়ের পূর্ব প্রস্তুতি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে খোলা হয়েছে সার্বক্ষণিক নিয়ন্ত্রণ কক্ষ।

কয়রা  উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিমুল কুমার সাহা জানান, দুর্যোগ প্রস্তুতি কমিটির জরুরি সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কয়রা উপজেলার  উপকূলীয় এলাকাগুলোতে ঘূর্ণিঝড়ের সর্তকতা জানিয়ে মাইকিং করা হচ্ছে। এছাড়া বিভিন্ন এলাকায় ১১৬টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ মোকাবেলায় আশ্রয় কেন্দ্রের  পাশাপাশি ওই সব এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাকা ভবনগুলো আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত রাখতে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে ও ১৪ টি মেডিকেল টিম প্রস্তুত রয়েছে। এ ছাড়া প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বক্ষনিক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের সাথে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।   

এদিকে, ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচির (সিপিপি) কয়রা  উপজেলা টিমলিডাররা জানান, যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য সিপিপি উপজেলার ১ হাজার ৪০ জন  স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রয়েছেন। ইতোমধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের সতর্কতা জানিয়ে তারা নদী তীরবর্তী এলাকায় মাইকিং শুরু করেছেন।

উপজেলা প্রশাসন ও সিসিপি পাশাপাশি  কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ ঝূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জান বাবুর  নির্দেশে যে  কোন পরিস্থিতিতে জনগণের পাশে আছে বলে জানান কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শরিফুল ইসলাম টিংকু। তিনি আরও জানান ইতি মধ্যে ছাত্রলীগ নেতা কর্মীরা বাংলাদেশর সর্বদক্ষিণের ঝুকিপূর্ণ বেড়িবাধঁ এলাকা দক্ষিণ বেদকাশিতে সর্তকতা মাইকিং করেন।

একজন কঠোর পরিশ্রমী মানুষের জীবনী

একজন কঠোর পরিশ্রমী মানুষের জীবনী

মিঠুন কুমার রাজ,
পিরোজপুর জেলা প্রতিনিধি।

 এই হলো আমাদের সবার পরিচিত ইন্দরকানী উপজেলার কালাইয়া গ্রামের মোঃ আলম ভাই। সদা হাসি খুশি সাদা মনের মানুষ একজন,জীবনের দু:খ কষ্ট নিয়ে তার নেই কোন অভিযোগ,সে যথেষ্ট পরিশ্রমী ও ধর্মভীরু একজন মানুষ।এলাকার মানুষের কাছেও সে একজন সৎ ও পরোপকারী মানুষ হিসাবে বিবেচিত।ছবিতে যে রিক্সা টা দেখছেন এটা ওনার।ছোটবেলা থেকে দেখে অাসছি,পৃথিবী পরিবর্তন হলে ও তিনি পরিবর্তন হতে পারেনি,পারেনি তার রিক্সাটারও পরিবর্তন করতে। তার প্রধান কারণ আর্থিক সমস্যা। এমন কি সে কখনো কারো কাছে হাত পাতেন নি সাহায্যের জন্য।এই বর্তমান যুগে ও সে প্যাডেল দিয়ে দিয়ে অনেক কষ্ট করে রিক্সা চালায়,যাকে বলে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে জীবিকা নির্বাহ করা। আমরা তো কতো মানুষকেই  সাহায্য করি দৈনন্দিন চলার পথে,যদি সমাজের কিছু বিত্তবান ব্যাক্তি যাদের সামর্থ্য অাছে তারা যদি একটু এগিয়ে এসে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়ে এই হাসিখুশি মানুষটার জীবনে উন্নয়নের চাকা ঘুরিয়ে দিতো তাহলে হয়তো সারাজীবন ছেলে বৌ নিয়ে সুখেদুঃখে একসাথে কাটাতে পারতো। তার রিক্সাটার জন্য যদি সাহায্যের হাত টা বাড়িয়ে দেন তাহলে আপনাদের সবার প্রতি চির কৃতজ্ঞ থাকবো।

নওগাঁর প্রতিবন্ধীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

নওগাঁর  প্রতিবন্ধীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

 

মোঃ ফিরোজ হোসাইন     
নওগাঁ প্রতিনিধি:

 নওগাঁর আত্রাইয়ে প্রতিবন্ধীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ মাঠে এর উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ছানাউল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগম, সমাজ সেবা অফিসার সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।

জানা গেছে, করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রতিবন্ধীরা যেন সমাজের বোঝা না হয়ে যায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এমন চিন্তা থেকে জেলা সমাজ কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে একশত প্রতিবন্ধী পরিবারের মাঝে নগদ পাঁচশত টাকা করে ত্রাণ প্রদান করা হয়।

ইউএনও মো. ছানাউল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গৃহিত পদক্ষেপ বাস্তবায়নে প্রতীবন্ধীদের ত্রাণ দেওয়া হলো। এসময় বৈশিক করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকার ও স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের নির্দেশ মেনে চলতে সর্ব সাধারণকে আহবান জানান তিনি।

হবিগঞ্জে ব্রি হাইব্রিড- ৩ ধানের অভুতপূর্ব সাফল্যে আশান্বিত কৃষক

হবিগঞ্জে ব্রি হাইব্রিড- ৩ ধানের অভুতপূর্ব সাফল্যে আশান্বিত কৃষক


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি 

হবিগঞ্জের মাধবপুরে প্রথম বারের মতো পরীক্ষামূলক বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের উদ্ভাবিত ব্রি হাইব্রিড -৩ জাতের ধানের প্রদর্শনী ফসল কাটা হয়েছে
সোমবার (১৮-মে) সকালে উপজেলার বহরা ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের কৃষক অর্জুন দেবনাথ এর জমিতে এ প্রদর্শনী ফসল কাটা হয় কৃষক অর্জুন দেবনাথ জানান কৃষি অধিদপ্তরের সহযোগীতায় আমি ৬০ শতাংশ জমিতে ব্রি হাইব্রিড-৩ ধানের প্রদর্শনী ফসলটি আবাদ করি ১৪০ দিনে এ ধান কাটা হয় ধানটিতে রোগ বালাই যেমন কম ফলনও হয়েছে দ্বিগুন।

সরকারের সহযোগীতা পেলে আগামীতে আমি সহ আমার আশপাশের কৃষকরাও এ জাতের ধান আবাদে আগ্রহী উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মুখলেছুর রহমান বলেন ব্রি হাইব্রিড ৩ জাতের প্রদর্শনী ফলাফলে দেখা যায় হেক্টর প্রতি এর ফলন হয়েছে ১১টন যা আটাশ বা অন্যান্য জাতের তুলনায় দ্বিগুন মাধবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, কৃষি অধিদপ্তরের তত্ত্বাব ধানে প্রথম বারের মতো মাধবপুর উপজেলায় ব্রি হাইব্রিড ৩ জাতের প্রদর্শনী ফসল আবাদ করা হয়।

এই ধানের উৎপাদনে এখানকার জমি খুবই উপযোগী এবং ফলাফল সন্তোষ জনক বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডাঃ প্রিয় লাল বিশ্বাস বলেন,ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের উদ্ভাবিত ব্রি হাইব্রিড ৩ জাতের ধানের ফলন হয়েছে দ্বিগুন ব্যাপক ভাবে এর আবাদ শুরু হলে দেশের খাদ্য চাহিদা মেটানো সহ বীজের জন্য বিদেশ নির্ভরতা কমে আসবে।

হবিগঞ্জ বাজারে নারী-পুরুষের উপচে পড়া ভিড়

হবিগঞ্জ বাজারে নারী-পুরুষের উপচে পড়া ভিড়


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট পৌর বাজারের বিভিন্ন মার্কেট রাস্তার পাশের দোকান গুলোতে মানুষের উপচে পড়া ভিড় দেখা যাচ্ছে। কেনাকাটা করতে আসা মানুষগুলো মানছেনা সামাজিক দূরত্ব।সরকারি নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই তারা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। অথচ এ উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে এক শিশু। ওসি সহ ২০ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন করোনা ঝুঁকিতে আছে উপজেলা
রবিবার দুপুরে বাজার ঘুরে দেখা গেছে, চুনারুঘাটের মধ্য 

বাজারের মানিক মিয়া কমপ্লেক্স সিকান্দর শপিং, কমপ্লেক্স বাল্লারোডের নিরঞ্জন শপিং কমপ্লেক্সের কাপড় জুতার দোকান ও কসমেটিকসের দোকান গুলোতে নারী,পুরুষের উপচে পড়া ভিড় ঈদের শপিং করতে আসা ক্রেতা-বিক্রেতারা কেউই সামাজিক দূরত্ব সহ স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। কোন নিরাপত্তা না মেনেই প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে তাদের ব্যবসা 
দিব্যি চালিয়ে যাচ্ছেন অথচ ব্যবসায়ীরা কিছু শর্ত সাপেক্ষে।

প্রশাসনের সাথে আলোচনা করে দোকান খোলার কথা প্রতিটি মার্কেটের সামনে জীবাণুমুক্তকরনের ব্যবস্থা রাখার কথা কিন্তু তারা প্রশাসনের নির্দেশনা মানছেন না রোববার বিকেল ভ্রাম্যমাণ আদালত নিয়ম ভেঙ্গে ব্যবসা করার কারনে চুনারুঘাট পৌর শহরের ১৩ টি দোকানের মালিককে ৬৮ হাজার টাকা জরিমানা করে উপজেলাবাসী করোনা মহামারী থেকে রক্ষা পেতে চুনারুঘাট উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসকের সুদৃষ্টি কামনা করছেন।

হবিগঞ্জে সীমান্তের অসহায় ৬০ পরিবার পেল বিজিবির ত্রাণ সামগ্রী

হবিগঞ্জে সীমান্তের  অসহায় ৬০ পরিবার পেল বিজিবির ত্রাণ  সামগ্রী


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
 
হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার সীমান্ত বর্তী এলাকায়  করোনার প্রভাবে কর্মহীন গরীব ও নিম্ন আয়ের শ্রমজীবি ৬০ পরিবারের মাঝে  বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) খাদ্য সামগ্রী  বিতরণ করা হয়েছে আজ সোমবার সকালে  উপজেলার তেলিয়াপাড়া বিওপি সংলগ্ন খোলা মাঠে স্বাস্হ্যবিধি মেনে  হবিগঞ্জ ব্যাটলিয়ান (৫৫)বিজিবি অধিনায়ক লেঃকর্নেল এস এন এম সামীউন্নবী চৌধুরী  বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন প্রদত্ত  ত্রান সামগ্রী  অসহায় পরিবারের  মাঝে বিতরণ করেন ত্রান সামগ্রীর মধ্যে ছিল চাল আটা ডাল তেল ছোলা এবং লবন। এসময় সহকারী পরিচালক নাসির উদ্দিন কোম্পানী ও বিওপি কমান্ডার স্হানী জন প্রতিনিধি গন্যমান্য ব্যক্তি উপস্হিত  ছিলেন।

মোংলায় ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ

মোংলায় ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায়   ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ



মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা।   
 অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ, কোস্ট গার্ড, বন বিভাগ, মোংলাপোর্ট পৌরসভা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। গতকাল ১৮ মে সোমবারের আবহাওয়া অফিসের সর্বশেষ খবর অনুযায়ি মোংলা সমুদ্র বন্দরকে ৭নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।  

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাষ্টার কমান্ডার ফকরউদ্দিন জানান ১৮ মে সোমবার বিকেল ৪টায় মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষথর সম্মেলন কক্ষে বন্দর চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজানের সভাপতিত্বে ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বন্দর কর্তৃপক্ষথর সকল বিভাগীয় প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক বন্দরের নিজস্ব রেড এলার্ট-৩ জারি করা হয়েছে। বন্দরে বর্তমানে ১১টি বাণিজ্যিক জাহাজ আছে। এছাড়া কোস্ট গার্ড-নেভীর জাহাজ আছে। বন্দরের বহিনোর্ঙ্গরে পন্য উঠা-নামার কাজ বন্ধ আছে। বন্দর জেটিতে সীমিত পরিসরে পন্য-উঠানামা চলছে। বন্দর কর্তৃপক্ষের দুটি কন্ট্রোল রুম চালু রয়েছে। অন্যদিকে সোমবার বিকেল ৫টায় উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার। সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাহাত মান্নান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ নাহিদুজ্জামানসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ১০৩ টি স্কুল কাম সাইক্লোন শেল্টার স্যানিটাইজ করে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে যার নম্বর ০৪৬৫৮-৭৩৩৩৬। সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগ বাগেরহাটের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ বেলায়েত হোসেন জানান তাদের কর্মকর্তাদের নিরাপদে থাকতে বলা হয়েছে। সুন্দরবনের জেলেদের নিরাপদে আশ্রয় গ্রহণ করতে বলা হয়েছে। কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোনের পক্ষ থেকেও সুন্দরবনে মাইকিং করে জেলেদের নিরাপদে থাকতে বলা হয়েছে এবং কোস্ট গার্ডের ষ্টেশন অফিস গুলিকে সাইক্লোন শেল্টার হিসেবে খোলা রাখা আছে। এছাড়া মোংলা পোর্ট পৌরসভার মেয়র মোঃ জুলফিকার আলী জানান পৌরসভার কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে এবং জনসাধারণের জন্য সচেতনতামূলক মাইকিং করা হচ্ছে। পৌর এলাকার সাইক্লোন শেল্টার গুলি প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

মধ্যবিত্তদের ঘরে ঈদ উপহার পৌঁছে দিলেন "অদম্য"

মধ্যবিত্তদের ঘরে ঈদ উপহার পৌঁছে দিলেন "অদম্য"


মিরসরাই প্রতিনিধি
মধ্যবিত্ত অর্ধশত পরিবারের মাঝে মিরসরাই উপজেলার অন্যতম সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন "অদম্য ২০০৫" এর ঈদ উপহার বিতরণ সম্পন্ন। সোমবার (১৮ মে) দুপুরে উপজেলার বামনসুন্দর বাজারস্থ সংগঠন কার্যালয়ে অনুষ্ঠানের উদ্ভোধন করেন অদম্যের শুভাকাঙ্ক্ষী কাটাছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বামনসুন্দর দারোগারহাট বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজ্বী আবুল বশর।

কার্যক্রমের সূচনা বক্তব্যে তিনি বলেন গত ১৫ দিনের মধ্যে অদম্য ৩য় বারের মত এমন কার্যক্রম সত্যি প্রশংসার দাবিদ্বার। ভবিষ্যতে এই রকম আরো সৃষ্টিশীল কার্যক্রম অদম্যের দ্বারা পরিচালিত হউক। আমি জীবিতকাল অদম্য সাথে থাকব।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন অধম্যের সাধারন সম্পাদক মঞ্জুর আলম ভূঁইয়া, কার্যক্রমের সার্বিক সমন্বয়ে ছিলেন, সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল হোসেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুম উদ্দিন,সহ দপ্তর সম্পাদক ফরহাদ উদ্দিন,সহ অর্থ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রাসেল।

অধম্যের সদস্যরা উপজেলার ১০নং মিঠানালা, ৭নং কাটাছড়া, ৬নং ইছাখালী ইউনিয়নের কিছু অংশে বাড়ী বাড়ী গিয়ে ঈদ উপহার সামগ্রী পৌঁছে দেন।

গ্রামীন ব্যাংক গান্ধাইল শাখার উদ্যোগে ভিক্ষুক সদস্যদের মাঝে নগদ টাকাসহ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

গ্রামীন ব্যাংক গান্ধাইল শাখার উদ্যোগে  ভিক্ষুক সদস্যদের মাঝে নগদ টাকাসহ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
সিরাজগঞ্জ কাজিপুর গ্রামীন ব্যাংক গান্ধাইল শাখায় সংগ্রামী ভিক্ষুক সদস্যদের মাঝে নগদ টাকাসহ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। সোমবার সকাল ১০ টায় গ্রামীন ব্যাংক গান্ধাইল শাখায় ৩০জন সংগ্রামী ভিক্ষুক দের মাঝে নগদ ৬০০ টাকা, ৩০ কেজি চাল, ৮ কেজি আলু, মসুর ডাল ৪ কেজি, পিয়াজ ৪ কেজি, 2 লিটার সয়াবিন তেল, ২ কেজি লবণ, ৪ টি সাবানসহ ৩২০০ টাকার খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন এবং সামাজিক দুরত্ব মেনে চলার পরামর্শ প্রদানের পাশাপাশি করোনা রোধে সচেতনতামূলক বক্তব্য রাখেন। উক্ত খাদ্য সামগ্রী বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন অদ্য শাখার ম্যানেজার অতুল চন্দ্র পাল, সেকেন্ড অফিসার মোঃ আশেক আহম্মেদ, মোঃ সানোয়ার হোসেন, মোঃ হেদায়েতুল ইসলাম, মোঃ মনিরুল ইসলাম, মোঃ ছালজার রহমান, মোছাঃ আলিক সিদ্দিকা, মোঃ রিপন শেখ ও মোঃ আব্দুল খালেক প্রমুখ। উল্লখ্য করোনার থাবায় ঘর বন্ধি কর্মহীণ  মানুষ গুলো যখন  ক্ষুধার  জালায় হাহাকার করছিলো অপর দিকে আসন্ন ঈদুল ফিতরে হত দরিদ্র মানুষের জীবন জীবিকা দূর্বিসহ হয়ে উঠছিলো।ঠিক সেই মূহুর্তে গান্ধাইল এলাকার ৩০ জন ভিক্ষুক পরিবার  গ্রামীন ব্যাংকের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী পেয়ে খুশি হয়ে বাড়ি ফেরেন তারা। 

নওগাঁয় কর্মহীনদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

নওগাঁয়  কর্মহীনদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ




মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর আত্রাইয়ে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায়, দিনমজুর, খেটে-খাওয়া ও হতদরিদ্রদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। 

সোমবার শুটকিগাছা বাজারের ডিএসকে ক্লাব প্রাঙ্গণে সিঙ্গাপুর ভিত্তিক সানরাইজ গ্লোবাল ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লি. এন্ড সানরাইজ ইউনিভার্সাল প্রাইভেট লি. এর সত্বাধিকারী ওহিদুর রহমান রহিতের অর্থায়নে ঈদ সামগ্রীগুলো বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইসরাফিল আলম। 

আরও উপস্থিত ছিলেন, আত্রাই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবাদুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলাল, সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, ডিএসকে ক্লাবের সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন তোতা, সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম চঞ্চল, সিঙ্গাপুর ভিত্তিক সানরাইজ কোম্পানির পক্ষে শহিদুল ইসলাম ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এলাকার ৩শ পরিবারের মাঝে এই সামগ্রীগুলো বিতরণ করা হয়। 

আয়োজক রবিউল ইসলাম চঞ্চল জানান, রহিত এই এলাকার কৃতিসন্তান। তিনি সিঙ্গাপুরে অবস্থান করলেও এলাকার অসহায়, দিনমজুর, খেটে খাওয়া ও হতদরিদ্রদের সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করে আসছেন। বর্তমানে সারাবিশ্ব করোনা ভাইরাসের মরণ থাবায় স্থবির হয়ে পড়েছে। এমন সংকটময় সময়ে রহিত তার এলাকার কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষদের ঈদ পূর্ব সময়ে সহযোগিতা প্রদানের লক্ষ্যে এই সামগ্রীগুলো বিতরণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। তাই আমরা স্থানীয়রা তারই অর্থায়নে এই ঈদ সামগ্রীগুলো বিতরণ করছি। রহিতের পক্ষ থেকে আগামীতেও এই সহযোগিতা প্রদান অব্যাহত থাকবে৷

শহীদ মশিয়ূর রহমান পাশাপোল অটিস্টিক ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে নগদ অর্থ পেলেন শিক্ষার্থীরা

শহীদ মশিয়ূর রহমান পাশাপোল অটিস্টিক ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে নগদ অর্থ পেলেন শিক্ষার্থীরা

এম. জামান, যশোর জেলা প্রতিনিধি:
আজ সোমবার চৌগাছা উপজেলার বিভিন্ন প্রতিবন্ধী স্কুলের শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। প্রত্যেকে পাঁচশত টাকা করে প্রধানমন্ত্রীর এই উপহার পেয়েছেন । প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় গুলোর মধ্যে পাশাপোল ইউনিয়নরে “শহীদ মশিয়ূর রহমান পাশাপোল অটিস্টিক ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে আছে ১৪১ জন শিক্ষার্থী। এই বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি,  উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ২নং পাশাপোল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অবাইদুল ইসলাম সবুজের সার্বিক তত্বাবধায়নে ২০১৫ সাল থেকেই শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীদের আনা নেওয়ার জন্যও আছে নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা। স্কুলের কার্যক্রমেও রীতিমতো খুশি উপজেলাবাসী।

উক্ত উপহার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চৌগাছা উপজেলার চেয়ারম্যান ড. অধ্যক্ষ মুস্তানিছুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব জাহিদুল ইসলাম। অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন ২নং পাশাপোল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অবাইদুল ইসলাম সবুজ, চৌগাছা প্রেসক্লাবের সভাপতি জিয়াউর রহমান রিন্টু, যুগ্ম সম্পাদক প্রভাষক হারুন-অর-রশিদ প্রমুখ।

আদিবাসী পরিবারের মাঝে ৭ম দফায় ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন এমপি কুদ্দুস

আদিবাসী পরিবারের মাঝে ৭ম দফায় ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন এমপি কুদ্দুস



রাজশাহী ব্যুরোঃ
 নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলায় এমপি আব্দুল কুদ্দসের নিজেস্ব অর্থায়নে মাঝগাঁও ও জোয়ারি ইউনিয়নের ২'শ কর্মহীন ও হতদরিদ্র আদিবাসী পরিবারের মাঝে ৭ম দফায় ত্রাণ সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে।আজ সোমবার (১৮ই মে) মাঝগাঁও ইউনিয়নের বাহিমালী বাজার মাঠে এ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।  ভবিষ্যতেও  আমাদের সামর্থ অনুযায়ী এ কার্যক্রম অব্যহত থাকবে বলে জানান,নাটোর-৪ (বড়াইগ্রাম -গুরুদাসপুর) আসনের সংসদ সদস্য সাবেক মন্ত্রী অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস।

তিনি আরো বলেন,গুরুদাসপুর বড়াইগ্রামের তথা সারা বাংলাদেশের প্রত্যেকটি মানুষের জীবন আমার ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী  শেখ হাসিনার কাছে সমানভাবে মূল্যবান।।  আমি খাব আর আমার জনগণ না খেয়ে থাকবে তা হবেনা। আপনারা প্রত্যেকেই আমার পরিবারের একেকজন সদস্য।আমার বাড়িতে একসন্ধার খাবার থাকলে সেই খাবার  বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুরের জনগণকে সাথে নিয়েই খাবো।

এসময় এমপি পুত্র আসিফ আব্দুল্লাহ বিন কুদ্দুস শোভন বলেন, করোনা ভাইরাস মহামারিতে মানুষ কর্মহীন হয়ে পরেছে। এমতঅবস্থায়  সরকার বা এমপিদের একার পক্ষে সবার ঘরে খাদ্য পৌছে দেয়া সম্ভব না। তাই সমাজের বৃত্তবানদের আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, আপনারা যার যার  অবস্থান থেকে  আপনাদের সামর্থ অনুযায়ী অসহায়দের পাশে দাঁড়ান।তিনি ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে বলেন,আপনার এই করোনা ভাইরাস মহামারির সুযোগ      নিয়ে কোন জিনিসের দাম বেশী নেবেন না। দেশের জনগণ বেঁচে থাকলে অনেক ব্যবসা করতে পারবেন।তার পরেও যদি আপনারা সাধারণ মানুষকে জিম্মা করে জিনিস পত্রের দাম বেশী নেন তাহলে আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। করোনা ভাইরাস মহামারিতে আপনারা আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হোন এবং সরকারি নিয়ম মেনে চলুন। নিজে সুস্থ থাকুন, অন্যদের সুস্থ থাকতে সহায়তা করুন। আমি আপনাদের সস্তান, আমি আপনাদের পাশে ছিলাম আছি এবং থাকবো ইনশাল্লাহ্।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন,মাঝগাঁও ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড সদস্য জাহিদুল ইসলাম জাহিদ,মাঝগাঁও ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম বাদশা,বনপাড়া পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান পিয়াস সহ বড়াইগ্রাম উপজেলা ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।

নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে ১ হাজার পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা

নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে ১ হাজার পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা

দিনাজপুর প্রতিনিধি : করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় ও দুস্থ্য ১ হাজার পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছেন দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার একাধিকবার শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।
আজ সোমবার (১৮ মে) বেলা ১২টার সময় উপজেলার নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেন খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ মাহবুব-উল ইসলাম। দুই সপ্তাহব্যাপী এই ত্রাণ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে উপজেলার ১ হাজার পরিবারের মাঝে এসব খাদ্য সামগ্রী বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কাজ করবেন বিদ্যালয়টির সাবেক শিক্ষার্থীরা।
সাবেক শিক্ষার্থী পুলিশ কর্মকর্তা রবিউল চৌধুরী বলেন, ‘খানসামা উপজেলার নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের পাশে আমরা দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। সরকারের পাশাপাশি আমরা বিদ্যালয়ের বিভিন্ন ব্যাচের শিক্ষার্থীরা মিলে প্রায় ২ লাখ টাকা উত্তোলন করতে সক্ষম হয়েছি। এই টাকা দিয়ে আমরা দুই সপ্তাহব্যাপী উপজেলার বিভিন্ন গরীব ও দুস্থ্য পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী উপহার বাড়ি পৌঁছে দিব। প্রতিটি প্যাকেটে একটি পরিবারের জন্য ১৫ দিনের খাদ্য সামগ্রী উপহার আছে। আমরা দেশের পরিস্থিতি দেখে এই কার্যক্রম আরো বৃদ্ধি করতে পারি।’
নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ত্রাণ সমন্বয় কমিটির সদস্য সচিব ও সাবেক শিক্ষার্থী রাশেদ মিলন বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর একটা বড় সুযোগ। আমাদের নিজেদের কোন অর্থ না থাকলেও আমরা যখন সবাই একত্রিত হলাম তখন বিরাট একটা অর্থ আমাদের সংগ্রহ হলো। আমরা সেই অর্থ দিয়ে ১ হাজার পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার কাজ শুরু করেছি। নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিটি ব্যাচের শিক্ষার্থীদের এজন্য কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। তারা আমাদের ডাকে সাড়া দিয়েছেন।’
নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমি নিজেও এই বিদ্যালয়টির সাবেক শিক্ষার্থী। সারা দেশের করোনা পরিস্থিতিতে আমাদের স্কুলের বিভিন্ন ব্যাচের শিক্ষার্থীরা যেভাবে এগিয়ে এসেছে তা গোটা দেশের জন্য দৃষ্টান্ত হতে পারে। বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে ১ হাজার পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী উপহার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার যে চেষ্টা এটা খুবই ভালো একটি উদ্যোগ। যারা এই কাজের সাথে সম্পৃক্ত তাদের প্রতি আমার এবং আমাদের বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা।’
উদ্যোগটির প্রশংসা করে খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ মাহবুব-উল ইসলাম বলেন, ‘সাবেক শিক্ষার্থীদের এরকম উদ্যোগ আমাদের অনেকের দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে পারে। সমাজে অনেকের অনেক কিছু থাকলেও বিপদের সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে না। কিন্তু নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীরা ১ হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী উপহার দেওয়ার যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন এটি আমাদের কাছে খুবই ভালো লেগেছে। এই উদ্যোগটি আমাদের কাছে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। এ সময় তিনি দেশের অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোকেও এভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করার আহবান জানান।’
খাদ্য সামগ্রী উপহার দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি শ্রী জিতেন্দ্রনাথ রায়, বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক মো. শফিকুল ইসলাম, ত্রাণ পরিচালনা কমিটির আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম শাহ ও অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ। এছাড়াও সাবেক শিক্ষার্থীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আব্দুর রাজ্জাক, ইব্রাহিম সরকার, প্রমথ রায়, একে আজাদ, মিলন দেব, আশরাফুল আলম রাসেল, লিটন দেবসহ প্রমুখ।

ভালোবাসার গহীন গাঙে - শাহ আলম জাহাঙ্গীর

ভালোবাসার গহীন গাঙে            - শাহ আলম জাহাঙ্গীর


কেবলি শূণ্য,মহাশূণ্য এ জীবন!
বিবর্ণ ফ্যাকাশে।
কাঠফাটা রোদ্দুরে যেমন পুড়ে মাঠঘাট,বনবাদাড় ফসলের মাঠ।
পুড়ে হৃদয়জমিন
অবশিষ্ট নেই অতটুকু?
অবুঝ শিশুর ওপর চলে যেখানে বলাৎকার!
মানবতার বসতঘর পুড়ে ছাই।
আগুন সন্ত্রাসে দগ্ধ এখন সাধারণ যাত্রী।
মায়ের কোলে কাৎরায় সুতীব্র দহন জ্বালায় শিশু।
কৃষ্ণচূড়া পলাশের রঙে হয়না রঙিন হৃদয়,
অব্যক্ত বেদনায় লীন।
ক্ষতবিক্ষত প্রাণ যায় না মোছা সহজে,
এসো, প্রজাপতি এসো, মেলো বর্ণিল পাখা,
উড়ো ফুলে ফুলে 
করো আকন্ঠপান
মানবপ্রেমের অমৃতসূধা।
ভাসাও রঙিন পানসী তোলো পাল
ভালোবাসার গহীন গাঙে।

মোহনগঞ্জে ধান কেটে বাড়ী ফেরা শ্রমিকদের কাছ থেকে চাঁদা নেওয়ায় চাঁদাবাজ আটক

মোহনগঞ্জে ধান কেটে বাড়ী ফেরা শ্রমিকদের কাছ থেকে চাঁদা নেওয়ায় চাঁদাবাজ আটক


আজহারুল ইসলাম মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি (নেত্রকোনা"
হাওড় অঞ্চলে মৌসুমের বোরো ধান কেটে বাড়ী ফেরা শ্রমিকদের কাছ থেকে চাঁদা নেওয়ার অভিযোগে বিল্লাল মিয়া(৩৬) নামে এক চাঁদাবাজকে আটক করেছে পুলিশ।বিল্লাল মোহনগঞ্জ উপজেলার বানীয়াজোড়া গ্রামের মৃত মোন্না মিয়ার ছেলে।

রবিবার (১৭ মে) বিকালে উপজেলার সীমান্তবর্তী ধর্মপাশা ব্রীজ সংলগ্ন সামাইকোনা এলাকা হতে থাকে আটক করে মোহনগঞ্জ থানা পুলিশ।
পুলিশ জানায় পাশ্ববর্তী সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ এলাকায় একদল শ্রমিক আসে সিরাজগঞ্জ জেলা হতে,তারা মুলত ধানের বিনিময়ে ধান কাটে,কাজ শেষে তাদের অর্জিত ৬০০ বস্তা ধান নিয়ে নৌকা দিয়ে নদী পথে বাড়ী ফিরছিল পথে মধ্যে নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ থানার সামাইকোনা এলাকায় ধর্মপাশা ব্রীজের কাছে নৌকা হতে বস্তা নামিয়ে ট্রাকে ভর্তি করার সময় বিল্লাল ও তার সহযোগীরা প্রতি বস্তা ৭ টাকা করে ৪২০০ টাকা চাঁদা দাবী করে, উপায়ান্তর না পেয়ে এক শ্রমিক মোহনগঞ্জ থানায় ওসির নাম্বারে ফোন করে, ফোন পেয়ে দ্রুত ছুটে যায় পুলিশ। পুলিশের আগমন টের পেয়ে অন্যরা পালিয়ে যায় এবং  বিল্লালকে আটক করে। পরে এই শ্রমিকদলের মোঃইমারত হোসেন নামে এক শ্রমিক থানায় এসে অভিযোগ দিলে মামলা নেয় পুলিশ।
জানাগেছে বিল্লাল ও তার সহযোগীরা প্রতিনিয়তই চাঁদা আদায় করে আসছিল,সে একজন পেশাদার চাঁদাবাজ।
এ বিষয়ে মোহনগঞ্জ থানার ওসি মোঃআব্দুল আহাদ খান জানান, চাঁদা বাজির বিযয়ে এক শ্রমিক আমার কাছে ফোন করলে, তৎক্ষনিক আমি পুলিশ পাঠাই,অন্যরা পালিয়ে গেলেও বিল্লালকে আটক করা হয়।বিল্লাল সহ চার জনের নামে থানায় মামলা হয়েছে।বাকী আসামীদের কে ধরার চেষ্টা অব্যাতত আছে।

মোংলায় সেবা সংস্থার পক্ষ থেকে করোনাকালীন দুস্থদের খাদ্য সহায়তা

মোংলায় সেবা সংস্থার  পক্ষ থেকে  করোনাকালীন দুস্থদের খাদ্য সহায়তা


মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা    
 করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে করোনাকালীন দুই শতাধিক দুস্থ পরিবারের মাঝে ১৮ মে সোমবার সকালে মোংলার মালগাজী সেক্রেটহার্ট প্রাইমারি স্কুলের মাঠে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা সেবা এর পক্ষ থেকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়।

সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় খাদ্য সহায়তা প্রদানকালে তাৎক্ষণিক সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সেবা সংস্থার  নির্বাহি পরিচালক মিনা হালদার। সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাহাত মান্নান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ, সেন্ট পল্স উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনীন্দ্র নাথ হালদার ও মালগাজী গার্লস স্কুলের প্রধান শিক্ষক তপন সরকার। এছাড়া সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ইউপি সদস্য রেজি সরকার, সেবাথর প্রান্ত, শাওন, মিষ্টি প্রমূখ। সমাবেশে বক্তারা করোনাকালীন মহামারির সময়ে সবাইকে ঘরে নিরাপদে থাকার আহ্বান জানান। বক্তারা বাড়ীতে শিক্ষার্থীদের পড়াশুনা চালিয়ে নেয়ার পরামর্শ প্রদান করেন। সেবা স্পন্সরশীপ প্রোগ্রামের আওতায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা সেবা এর  পক্ষে দুই শতাধিক করোনাকালীন দুস্থ পরিবার মাঝে চাল, ডাল, তেল, আলু, লবনসহ বিভিন্ন প্রকার খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

মিরসরাইয়ে উদয়ন ক্লাবের ঈদ উপহার

মিরসরাইয়ে উদয়ন ক্লাবের ঈদ উপহার


মিরসরাই প্রতিনিধিঃ
মিরসরাই উপজেলার অন্যতম স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন করেরহাট উদয়ন ক্লাবের উদ্যেগে করোনার প্রভাবে কর্মহীন শ্রমজীবি মানুষ ও হতদরিদ্রদের মাঝে ঈদ উপহার (খাদ্য সামগ্রী) বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার (১৮ মে) সকালে ক্লাব কার্যালয়ে করেরহাট ইউনিয়নের প্রায় শতাধিক পরিবারের মাঝে এসব ঈদ উপহার তুলে দেয়া হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন, উদয়ন ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জানে আলম, প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, বর্তমান সভাপতি সালাউদ্দিন, সাবেক সহ-সভাপতি দিলীপ বণিক, সাধারন সম্পাদক শহীদ উল্লাহ মেম্বার, ইউপি সদস্য আজাদ উদ্দিন, সহ-সভাপতি কেফায়েত হোসেন রাজু, প্রচার সম্পাদক সরোয়ার উদ্দিন, কার্যকরী সদস্য আলাউদ্দিন আলো। পরিশেষে এই মহামারির কবল থেকে মুক্তির চেয়ে আল্লাহর দরবারে দোয়া করা হয়।


২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ শনাক্ত ১৬০২, মৃত্যু ২১

২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ শনাক্ত ১৬০২, মৃত্যু ২১


নিউজ ডেস্ক: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১ হাজার ৬০২ জন করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। একই সময় মারা গেছেন সর্বোচ্চ ২১ জন। 

এ নিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত ২৩ হাজার ৮৭০ জন করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হলেন। আর এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৩৪৯ জন। দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে আজ সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানানো হয়।গতকাল রোববার দেশে করোনায় সংক্রমিত ১ হাজার ২৭৩ জন শনাক্ত হওয়ার কথা জানানো হয়েছিল। আর মারা গিয়েছিলেন ১৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২১ জনের মধ্যে পুরুষ ১৭ জন ও নারী ৪ জন। তাঁদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৭ জন, কুমিল্লা বিভাগে একজন ও রাজশাহী বিভাগে একজন রয়েছে।
মারা যাওয়া ব্যক্তিদের বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ছয়জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৮ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৫ জন রয়েছেন।
গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২১২ জন। এ নিয়ে সর্বমোট ৪ হাজার ৫৮৫ জন সুস্থ হয়েছেন।
ব্রিফিংয়ের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘণ্টায় ৯ হাজার ৭৮৮ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়।
দেশে এখন ৪১টি ল্যাবে (পরীক্ষাগার) করোনা পরীক্ষা করা হয়।
গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তি শনাক্তের ঘোষণা আসে। আর ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।
করোনার ঝুঁকি এড়াতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন

গ্রামীণ ব্যাংকের ভিক্ষুক সদস্যদের মাঝে নগদ অর্থ ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

গ্রামীণ ব্যাংকের ভিক্ষুক সদস্যদের মাঝে নগদ অর্থ ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় গ্রামীন ব্যাংকের  দিনাজপুর জেলার সকল শাখায় উদ্যোগে অব্যাহত কর্মসুচীর অংশ হিসাবে ভিক্ষুক সদস্যদের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।  
এরই ধারাবাহিকতায় ১৮ মে সোমবার ব্যাংকের সুন্দরবন দিনাজপুর শাখায় (চিরিরবন্দর এরিয়া) ত্রান সামগ্রীসহ নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান হয়।
শাখার তালিকা ভুক্ত ৫ জন ভিক্ষুক সদস্যদের ২য় দফায় নগদ ৬’শত টাকা ও ২৬ শত টাকার ত্রাণ সামগ্রীসহ মোট ৩২০০ টাকা সম মুল্যের ত্রান সামগ্রী বিতরণ করা হয়। অত্র শাখায় এ পযন্ত ১০ জন ভিক্ষুক সদস্যর মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।
বিতরণ কালে উপস্থিত ছিলেন গ্রামীণ ব্যাংক সুন্দরবন দিনাজপুর শাখার শাখা ব্যাবস্থাপক মোঃ মাসুদ পারভেজ এবং দ্বিতীয় অফিসার মোঃ সালাউদ্দিন।

করোনা পরিস্থিতেতে ঘর থেকে বের হয়ে বাজারে যাওয়া, জেনে শুনে বিষ পান করার শামিল হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি

করোনা পরিস্থিতেতে ঘর থেকে বের হয়ে বাজারে  যাওয়া, জেনে শুনে বিষ পান করার শামিল হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি

দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥  জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধকালীন সময় সাংবাদিকরা জীবনের ঝুকি নিয়ে সংবাদ সংগ্রহ ও পরিবেশন করেছেন। প্রাথমিক পর্যায়ে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় তাদের প্রয়োজনীয় প্রটেকশনও ছিলনা। কিন্তু জনগনকে সচেতন এবং করোনা রোগী সনাক্ত করার ক্ষেত্রে তারা বিভিন্ন জায়গা ঘুরে বেড়িয়ে তাদের খোঁজ খবর নিয়ে মানবিকতার পরিচয় দিয়েছেন এজন্য তাদের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, করোনা রোগীদের সংবাদ সংগ্রহ ও পরিবেশন করে এবং করোনা প্রতিরোধে জনগনকে সচেতন করার ক্ষেত্রে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকসহ গণমাধ্যম বন্ধুরা গুরুত্বপুর্ন অবদান রেখেছেন। জাতি কৃতজ্ঞ চিত্তে তা স্মরন করবে। বিভিন্ন সময়ে করোনা মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিকনির্দেশনা মুলক বক্তব্য প্রচার করছেন। এছাড়াও চিকিৎসকদের পরামর্শমুলক বক্তব্য প্রচার করে তারা জনগনকে সচেতন করে তোলার ক্ষেত্রে গুরুত্বপুর্ণ অবদান রাখছেন। ইতোমধ্যে সাংবাদিকরা জীবনের ঝুকি নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মৃত্যু বরণ করেছেন। তিনি তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং যে সমস্ত সাংবাদিক কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তাদের দ্রুত রোগমুক্তি কামনা করেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাংবাদিকদের সহায়তা প্রদান করে তাদের পাশে আছেন ও থাকবেন। তিনি করোনা ভাইরাসের হাত থেকে দেশবাসীকে রক্ষা জন্য মহান আল্লাহর কাছে রহমত কামনা করেন এবং জনগনকে ঘর থেকে বের না হয়ে সচেতন হওয়ার আহবান জানান। তিনি আরও বলেন, বাজারে বেশি জনসমাগম করোনায় মৃত্যুর ঝুকিকে বাড়িয়ে তুলবে। এটা খুব দুঃখ জনক। তিনি জেনে শুনে বিষপান না করার জন্য জনগনের প্রতি আহবান জানান। 
১৮ মে সোমবার দিনাজপুর প্রেসক্লাবে ফটো সাংবাদিক, টিভি ক্যামেরাম্যান ও সংবাদপত্র হকার্সদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঈদ উপহার পৌছে দিচ্ছেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ইমদাদ সরকার, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরুপ বকসী বাচ্চু, সাধারন সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল, সাবেক সভাপতি চিত্ত ঘোষ, শহর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রায়হান কবীর সোহাগ প্রমুখ।

হবিগঞ্জে ১৫ কেজি গাঁজাসহ আটক -১

হবিগঞ্জে ১৫ কেজি গাঁজাসহ আটক -১


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় ১৫ কেজি গাঁজাসহ, জাহান মিয়া (২০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ সোমবার (১৮-মে) রাত ৪ টার দিকে মাধবপুর উপজেলার সুরমা চা বাগানের ১৪ নাম্বার সেকশন এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এবং এ সময় পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে।

তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। জাহান মিয়া মাধবপুর উপজেলা শাহজাহানপুর ইউনিয়নের রসুলপুর ( পপ্মাবিল) গ্রামের মৃত ফুল মিয়ার ছেলে। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গোপন সূত্রে সাতছড়ির দিক থেকে সুরমা চা বাগানের ভেতর দিয়ে বিপুল পরিমাণ মাদক, আসছে খবর পেয়ে তেলিয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ  ইন্সপেক্টর গোলাম মোস্তফা এর নেতৃত্বে এসআই রকিবুল হাসান ও এএসআই জিয়াউর রহমানসহ 

পুলিশের একটি দল সোমবার ভোর রাতে সুরমা চা বাগানের ১৪ নম্বর সেকশন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৫ কেজি ভারতীয় গাঁজাসহ জাহান মিয়াকে আটক করে। এ সময় পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে তার সহযোগীরা চা বাগানের ভেতর দিয়ে পালিয়ে যায়। তেলিয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর গোলাম মোস্তফা সত্যতা নিশ্চিত করে, জানান আটককৃত ব্যাক্তির বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

দিনাজপুরে শিল্পপতি জিয়াউল কাওসার বিপুর সহায়তায় ত্রাণ বিতরণ

দিনাজপুরে শিল্পপতি জিয়াউল কাওসার  বিপুর সহায়তায় ত্রাণ বিতরণ


দিনাজপুর প্রতিনিধি:বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় কর্মহীন ও অসহায় পরিবারের মানুষদের বাঁচাতে দিনাজপুরে শিল্পপতি জিয়াউল কাওসার বিপু‘র উদ্দ্যোগে ত্রান বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে। 

দেশের এই ক্লান্তিকালে ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানসহ ব্যক্তিগত উদ্যোগে এখন অনেকেই কর্মহীন অসহায় মানুষদের প্রতি সহযোগিতার হাত প্রসারিত করেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় আজ সকালে দিনাজপুরে ঢাকাস্থ জিয়া অটোরাইস মিলের সত্বাধিকারী ও বিশিষ্ট সমাজসেবী শিল্পপতি জিয়াউল কাওসার বিপুর সৌজন্যে শহরের শতাধিক সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে ত্রান সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

আজ সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে শহরের বিভিন্ন এলাকার অসহায় হতদরিদ্র নিম্ন আয়ের  কর্মহীন শতাধিক মানুষের হাতে ত্রান সামগ্রী তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চু। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল, সহ:সাধারন সম্পাদক রতন সিং।

ত্রাণ বিতরণকালে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত আলোচনায় বক্তারা বলেন,এমন দূর্যোগে দেশের শিল্পপতি ও বিত্তবানরা এভাবে এগিয়ে এসে যদি অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের পাশে দাড়ায় তাহলে এই বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাস মোকাবেলা করা মানুষের জন্য অনেক সহজ হবে। পাশাপাশি যাদের সামর্থ আছে তারা যেন সাধ্য মত এসব গরীব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়ান,এবং তাদের খোজ খবর নেয়ার আহ্বানও জানান বক্তারা।

বিতরনকৃত ত্রাণ সামগ্রীর মধ্যে ছিলো মিনিকেট চাল ৫ কেজি,চিনিগুড়া পোলার চাল ১ কেজি,,আলু ২ কেজি,মশুরের ডাল ১ কেজি, সোয়াবিন তেল ১/২ কেজি,লাচ্ছা সেমাই ১/২ কেজি,ড্যানিশ কনডেন্স মিল্ক ১টি, চিনি ১ কেজি। অনুষ্ঠানে এসময় বিভিন্ন প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

হবিগঞ্জ থেকে গাড়ি চালক নিখোঁজ!

হবিগঞ্জ থেকে গাড়ি চালক নিখোঁজ!


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি 

হবিগঞ্জের শ্মশান ঘাট এলাকা থেকে সাগর সরকার নামে এক চালক নিখোঁজ হয়েছে। মনতলা সুরুজ আলীর বাড়ি থেকে গাড়িটি জব্দ হলেও চারদিন অতিবাহিত হওয়ার পরও এখন পর্যন্ত সাগরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এই ঘটনায় গাড়ির মালিক কবির হোসেন ও সাগরের এক বন্ধুকে আটক 

করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।
জানা যায়, গত ১৩ মে সকালে সাগর গাড়ি নিয়ে মাধবপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় এরপর থেকে সে নিখোঁজ  ও তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ। ১৪ মে গাড়িটি মনতলা সুরুজ আলীর বাড়ি থেকে পুলিশ উদ্ধার করে। এতে সাগরের পরিবারের সন্দেহ হলে রবিবার (১৭-মে) রাতে হবিগঞ্জ সদর থানায় সাগরের বাবা প্রদীপ সরকার একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন। অপরদিকে গাড়ির মালিক গাড়ি 

পাওয়া যাচ্ছে না এ মর্মে সাধারণ ডায়েরি করেন। শুক্রবার রাতে গাড়ির মালিক কবির হোসেন ও সাগরের এক বন্ধুকে সদর থানার এসআই পলাশ চন্দ্র দাস জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেন হবিগঞ্জ সদর থানার (ওসি) মাসুক আলী জানান সাগরকে উদ্ধারের জন্য অভিযান চলছে এবং সন্দেহজনক লোকদের গোপনীয় ভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে অচিরেই ঘটনার রহস্য উদঘাটন হবে।

আত্নমর্যাদাশীল ও বুদ্ধিমাণ শিল্পী বাবুই পাখি এখন বিলুপ্তির পথে

আত্নমর্যাদাশীল ও বুদ্ধিমাণ  শিল্পী বাবুই পাখি  এখন বিলুপ্তির পথে


মোঃ হাবিবুর রহমান শাকিল ডিমলা নীলফামারী প্রতিনিধি:


আত্নমর্যাদাশীল ও বুদ্ধিমাণ শিল্পী বাবুই পাখি  আজ বিলুপ্তির পথে বাসা তৈরীর নিপূণ কারিগর বাবুই পাখি।
গ্রাম বাংলায় এখন আর আগের মতো চোখে পড়ে না বাবুই পাখির দৃষ্টিনন্দন বাসা।আগে  নীলফামারী জেলার ডিমলা উপজেলার দক্ষিণখড়িবাড়ী ইউনিয়নের গ্রাম এলাকায় খুব দেখা যেত।
সময়ের বির্বতন আর পরিবেশ বিপর্যয়ের কারণে আজ আমরা হারাতে বসেছি এ পাখিটি। নীরেন্দ্রনাথ রায়   কপোতাক্ষ নিউজে  জানান সেই সঙ্গে হারিয়ে যাচ্ছে শিল্পী, স্থপতি ও সামাজিক বন্ধনের কারিগর বাবুই পাখি ও এর বাসা। 
তালগাছের কচিপাতা, খড়, ঝাউ ও কাশবনের লতাপাতা দিয়ে উঁচু তালগাছে নিপুণ দক্ষতায় বাসা তৈরি করত বাবুই পাখি। সেই বাসা দেখতে যেমন আকর্ষণীয় তেমনি মজবুত।প্রবল ঝড়েও তাদের বাসা ভেঙে পড়ে না। শক্ত বুননের এ বাসা টেনেও ছেঁড়া যায় না। বড় আশ্চর্যের বিষয় হলো, ভারসাম্য রক্ষার জন্য বাসার ভেতরে থাকে কাদার প্রলেপ। বাবুই পাখির অপূর্ব শিল্পশৈলীতে মুগ্ধ হয়ে কবি রজনীকান্ত সেন তাঁর কবিতায় লিখেছিলেন- “বাবুই পাখিরে ডাকি বলিছে চড়ুই,কুঁড়েঘরে থেকে কর শিল্পের বড়াই। এই অমর কবিতাটি এখন এ দেশে তৃতীয় শ্রেণির বাংলা বইয়ে পাঠ্য হিসেবে অন্তর্ভূক্ত। শুধুমাত্র পাঠ্যপুস্তকের কবিতা পড়েই এখনকার শিক্ষার্থীরা বাবুই পাখির শিল্পকর্মের কথা জানতে পারছে।
এখন আর চোখে পড়ে না বাবুই পাখি ও এর নিজের তৈরি দৃষ্টিনন্দন স্থাপত্যশৈলী। সরু চিকন পাতা দিয়ে তৈরি বাবুই পাখির বাসা আর দেখা যায় না। দেখা যায় না এর সামাজিক জীবন ধারাও। অভিজ্ঞ মানুষ মাত্রই জানে বাসা তৈরির পর সঙ্গি খুজতে যায় অন্য বাসায়। সঙ্গি পছন্দ হলে স্ত্রী বাবুইকে সাথী বানানোর জন্য কতই না করে এরা। পুুরুষ বাবুই নিজেকে আকর্ষণীয় করার জন্য খাল বিল ও ডোবায় ফুর্তি করে নেচে বেড়ায় গাছের ডালে ডালে।

বাসা তৈরির কাজ অর্ধেক হলেও কাঙ্খিত স্ত্রী বাবুইকে সেই বাসা দেখায়। বাসা পছন্দ হলেই কেবল সম্পর্ক তৈরি হয়। স্ত্রী বাবুই বাসা পছন্দ করলে বাকি কাজ শেষ করতে বাবুইয়ের সময় লাগে চারদিন। স্ত্রী বাবুই পাখির প্রেরণা পেয়ে পুরুষ বাবুই মনের আনন্দে শিল্পসম্মত ও নিপুণভাবে বিরামহীন কাজ করে বাসা তৈরি করে। বাসার ভেতরে ঠিক মাঝখানে একটি আড়া তৈরি করে, সেখানে পাশাপাশি দুটি পাখি বসে প্রেমালাপসহ নানা রকম গল্প করে।

তারপর নিদ্রা যায় এ আড়াতেই। কী অপূর্ব বিজ্ঞানসম্মত শিল্প চেতনাবোধ তাদের! একটা সময় ছিল, একটি তালগাছে ঝুলে থাকত অসংখ্য বাসা। সে দৃশ্য বড়ই নান্দনিক এবং চিত্তাকর্ষক যা চোখে না দেখলে সে দৃষ্টিনন্দন দৃশ্য কাউকে বোঝানো সম্ভব নয়। এসব শিল্পকর্মের ছবি। ব্যবহার করে অনেক ক্যালেন্ডার তৈরি হতো। অফুরন্ত যৌবনের অর্ধিকারি প্রেমিক বাবুইয়ের যতই প্রেমই থাক, প্রেমিকার ডিম দেওয়ার সাথে সাথে প্রেমিক বাবুই খুঁজতে থাকে আরেক প্রেমিকা ।

পুরুষ বাবুই এক মৌসুমে ছয়টি বাসা তৈরি করতে পারে। ধান ঘরে ওঠার মৌসুম হলো বাবুই পাখির প্রজনন সময়। দুধ ধান সংগ্রহ করে স্ত্রী বাবুই বাচ্চাদের খাওয়ায়। এরা তালগাছেই বাসা বাঁধে বেশি। তালগাছ উজাড় হওয়ার কারণে বাবুই পাখি এখন বাধ্য হয়ে অন্য গাছে বাসা বাঁধছে। এক সময় নীলফামারী জেলা উপজেলায় গ্রাম অঞ্চল গুলোতে প্রচুর পরিমাণে দেখা যেত।

৮০র দশকে ফসলে কীটনাষক ব্যবহার করার ফলে আর মৃত পোকামাকড় খেয়ে বাবুই পাখির বিলুপ্তির প্রধান কারণ বলে মনে করা হচ্ছে। প্রকৃতির বয়ন শিল্পী, স্থপতি এবং সামাজিক বন্ধনের কারিগর নামে সমধিত পরিচিত বাবুই পাখি আর তার বাসা এখন আর চোখে পড়ে না। এক শ্রেনীর লোক শিকার করছে বাবুই পাখি। অন্যদিকে খাঁচায় বন্দি করে বেচা কেনাও হচ্ছে এ পাখি। খোঁজ নিয়ে যানা গেছে একশ্রেণীর মানুষ অর্থের লোভে বাবুই পাখির বাসা সংগ্রহকরে শহরে ধনীদের কাছে বিক্রি করছে। গাছে গাছে এসব বাসা এখন আর দৃশ্যমান না হলেও শোভা পাচ্ছে শহরের ধনীদের ড্রয়িং রুমে ও চাদে।

হবিগঞ্জে প্রশাসনের বিশেষ অভিযান জরিমানা আদায়

হবিগঞ্জে প্রশাসনের বিশেষ অভিযান জরিমানা আদায়


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি 

করোনা ভাইরাস এর সংক্রমণ প্রতিরোধে রবিবার (১৭মে) বিকালে, হবিগঞ্জের চুনারুঘাট বাজারে সরকারি নির্দেশনা অমান্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রণীত স্বাস্থ্যবিধি না মেনে দোকান পরিচালনা করায় ভ্রাম্যমান আদালতের বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সময় চুনারুঘাট বাজারের বেশ কয়েকটি দোকানের মালিককে ১৩ টি মামলা সহ ৬৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়

এ সময় উপস্থিত থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব সত্যজিৎ রায় দাস এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) জনাব মিলটন চন্দ্র পাল। তাদের সার্বিক সহযোগিতায় ছিল চুনারুঘাট থানা পুলিশের একটি টিম। এসময় উপজেলা প্রশাসন চুনারুঘাটের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকার প্রনীত যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সকলকে আহ্বান জানিয়েছেন।

এবং চুনারুঘাটবাসীকে বিনা প্রয়োজনে বাসা থেকে বের না হওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন প্রতিটি মার্কেটের সামনে জীবাণুমুক্তকরণ এর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা রাখার জন্য জন্য দোকান মালিক সমিতির সকল সদস্যদের উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে

হবিগঞ্জে ঢাকা থেকে আসা সেলুন কর্মচারী করোনা আক্রান্ত

হবিগঞ্জে ঢাকা থেকে আসা সেলুন কর্মচারী করোনা আক্রান্ত


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি 

হবিগঞ্জের মাধবপুর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডে গঙ্গানগর গ্রামের ঢাকা থেকে আসা এক সেলুন কর্মচারী করোনা ভাইরাস পজিটিভ ধরা পড়েছে রবিবার (১৭-মে) রাতে ঢাকা পরীক্ষা কেন্দ্র (লিনিং) থেকে তার পজিটিভ রিপোর্ট আসে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডাঃ ইশতাক মামুন সত্যতা নিশ্চিত করেন রিপোর্ট আসার পরই করোনা আক্রান্ত রোগীকে হবিগঞ্জ শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি 

এড়াতে তার সংস্পর্শে আসা পরিবার ও আশ পাশের লোকজন কে হোম কোরেন্টাইন মেনে চলতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ইকবাল হোসেন জানান, রিপোর্ট পাওয়ার পর পরই তার সংস্পর্শে আসা বাড়ি ঘরের লোকজন কে কোরেন্টাইন মেনে চলতে নির্দেশনা দেয়া হয়, গত বুধবার তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে ঢাকার গোপীবাগ থেকে বাড়ি আসে গত ১৪ তারিখ তার স্যাম্পল সংগ্রহ করে ঢাকার (লিনিং) পাঠানো হয় রবিবার তার পজিটিভ রিপোর্ট আসে এনিয়ে।

মাধবপুর উপজেলায় তিন সরকারী কর্মকর্তা সহ ছয় জন আক্রান্ত হন এবং এর মধ্যে সিনিয়র ষ্টাফ নার্সসহ এক নারীর রিপোর্ট পরে নেগেটিভ আসে তিন কর্মকর্তার দ্বিতীয় রিপোর্ট নেগেটিভে এসেছে বলে নিশ্চিত করেন মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, মাধবপুর থানার উপ-পরিদর্শক  এসআই মোসলেহ উদ্দিন জানান, ওসি স্যারের নির্দেশে রাত সাড়ে ১১ টার দিকে করোনা আক্রান্ত রোগীর বাড়ি গিয়ে তার সংস্পর্শের আসা পরিবার ও আশ পাশের লোকজন কে হোম কোরেন্টাইনের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

ডিমলায় হাফেজ কল্যাণ পরিষদ’র উদ্দ্যোগে কর্মহীন মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

ডিমলায় হাফেজ কল্যাণ পরিষদ’র উদ্দ্যোগে কর্মহীন মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ



মোঃ হাবিবুর রহমান শাকিল ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধি:



নীলফামারীর ডিমলা ১ নং পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নে করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছে সামাজিক সংগঠন পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়ন হাফেজ কল্যাণ পরিষদ।

রবিবার (১৭-মে) ১নং পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়ন হাফেজ কল্যাণ পরিষদ’র সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মোঃ সুজন ইসলাম’র নেতৃত্বে পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নের কিছু কর্মহীন মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ২০ টি পরিবারের মাঝে এই ত্রাণ বিতরণ করা হয়। ত্রাণ এর মধ্যে রয়েছে,চাল ৫ কেজি,ডাল ৫০০গ্রাম,তেল ৫০০গ্রাম,আটা ১ কেজি,আলু ১ কেজি,সাবান ১টি।

বিতরণকালে সংগঠনের আহবায়ক হাফেজ মোঃ আবু তাহের বলেন, করোনা সংকটের এই মুহুর্তে প্রত্যেকের সামর্থ্য অনুযায়ী অসহায়, কর্মহীন মানুষের পাশে এসে দাঁড়াতে হবে। আমাদের সংগঠনের সদস্যরা সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে। আজকে আমাদের সংগঠনের সকল সদস্যদের প্রচেষ্ঠায় আমরা এই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করতে পেরেছি।

তিনি আরও বলেন, মানবতার কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে সামাজিক সংগঠন
১নং পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়ন হাফেজ কল্যাণ পরিষদ। সকলে মিলে ছোট ছোট ভালো করলে একদিন এই সমাজ মানবিক হয়ে উঠবে। অভাবগ্রস্ত মানুষকে সাহায্য করার শুভ প্রয়াস অব্যাহত রাখাবে। মানুষ ও মনুষ্যত্বের মানবীয় মর্যাদা প্রতিষ্ঠার লক্ষে আমরা কাজ করে যাবো।

ত্রাণ সামগ্রী বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন, আহবায়ক
হাফেজ মোঃ আবু তাহের, আপ্যায়ন সম্পাদক
হাফেজ মোঃ সাহেদ আলি।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সহ-সভাপতি হাফেজ মোঃ মোস্তাকুল হাসান তৃপ্ত,আইন বিষয়ক সম্পাদক
হাফেজ মোঃ মোরশেদ ইকবাল, ত্রাণ সম্পাদক
হাফেজ মোঃ বেলাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক
হাফেজ মোঃ ফাহিম হাসান,সমাজ কল্যাণ সম্পাদক
হাফেজ মোঃ আরিফ হোসেন প্রমুখ।

মোটর- সাইকেলের চাকা বাস্ট হয়ে তিলকের মৃতু

মোটর- সাইকেলের চাকা বাস্ট হয়ে তিলকের মৃতু


নিউজ ডেস্কঃ  

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সরকারি খেপুপাড়া মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি ২০১১ ব্যাচের মেধাবী ছাত্র তিলক পাল (২৮) আর নেই।

রবিবার(১৭ মে) দিবাগত রাত সাড়ে নয়টায় কলাপাড়া উপজেলার বালিয়াতলী ইউনিয়নের তুলাতলী নামক স্থানে মোটর-সাইকেলের টায়ার বাস্ট হয়ে ঘটনা স্থলেই নিহত হন তিনি। নিহত তিলক কলাপাড়া পৌর শহরের ০৬ নং ওয়ার্ড (ইসলামপুর) নিবাসী সমীর পালের বড় ছেলে।

এছাড়াও মোটরসাইকেলে থাকা পৌর শহরের বাদুরতলী শাহজাহান মিয়ার ছেলে তানজিল (২৪) ও নাচনা পাড়ার মোঃ জামালের ছেলে সুমন (১৮) কে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য  পাঠানো হয়েছে।

মৃত্যুকালে তিনি বাবা-মা, ছোট ভাই এবং অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পরলে সহপাঠী আত্নীয় এবং এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

তার অকাল মৃত্যুতে গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন তার শিক্ষক, আত্নীয় এবং সহপাঠীরা।