ঘুর্নিঝড় আম্পানে জনগনের পাশে আছেন কয়রা সদর ইউপি চেয়ারম্যান

ঘুর্নিঝড় আম্পানে জনগনের পাশে আছেন কয়রা সদর ইউপি চেয়ারম্যান



  মোহাঃ ফরহাদ হোসেন কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ , ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ নিয়ে আতঙ্ক ক্রমশ বাড়ছে কয়রা উপজেলার উপকূলজুড়ে। বিশেষ করে বেড়িবাঁধ ভাঙা জনপদ কয়রার ৭টি ইউনিয়নের মানুষ জলোচ্ছ্বাসের আতঙ্কে আছেন। নদীর তীরবর্তী বেড়িবাঁধের বাইরে ও বাঁধের কাছাকাছি মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। তারই ধারাবাহিতয় ঘুর্ণিঝড় অাম্পান মোকাবেলা করার জন্য সর্বক্ষণ জনগনের পাশে অাছেন  কয়রা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এইচ এম হুমায়ুন কবির। 
 তিনি  ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ডের জনগনের খোঁজ-খবর নিচ্ছেন এবং সদর ইউনিয়নের ঝুঁকিপূর্ন বেড়িবাঁধ  হরিণ খোলা, গোবরা ঘাটাখালি,২নং কয়রা,মদিনাবাদ লন্চ ঘাট,হামখুড়ো ও ৪নং কয়রা ৬নং কয়রা বেড়িবাঁধ গুলো তদারকি করেন। সেই সাথে সকলের নিরপদে স্থানে  থাকার অনুরোধ করছেন।

মধুপুরে গ্রামীণ ব্যাংকের দ্বিতীয় ধাপে খাদ্য সহায়তা ও নগদ অর্থ প্রদান

মধুপুরে গ্রামীণ ব্যাংকের দ্বিতীয় ধাপে খাদ্য সহায়তা ও নগদ অর্থ প্রদান


 মো: আ: হামিদ মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ-

টাঙ্গাইলের মধুপুরে ১২০টি ভিক্ষুককে (সংগ্রামী সদস্য) খাদ্য ও নগদ অর্থ সহায়তা দিয়েছে গ্রামীণ ব্যাংক মধুপুর শাখা।

মঙ্গলবার (১৯ মে)সকালে মধুপুর গ্রামীণ ব্যাংক জোনাল অফিস  চত্তরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ওই সহায়তা প্রদান করা হয়।

গ্রামীণ ব্যাংক মধুপুর শাখার  ম্যানেজার শফিকুজ্জামান জানায়, মধুপুর জোনাল অফিসের অন্তর্ভূক্ত এ অঞ্চলের ভিক্ষা বৃত্তি থেকে ফেরানো প্রকল্পে  ৩৮৮ সংগ্রামী সদস্য (ভিক্ষুক) রয়েছে। তাদের অনেকে ভিক্ষা বৃত্তি ছেড়ে সক্ষমতা অনুযায়ী কাজ ও ক্ষুদ্র ব্যবসা করছে। এই মমহামারী করোনা সংকটের এসময়ে ওই অসহায়দের আয় রোজগার বন্ধ।  ওই কর্মহীনদের মাঝে দ্বিতীয়  ধাপে ৩৫ কেজি চাল, ৪ কেজি ডাল, ২লিটার তেল, ৮ কেজি আলু, ৪ কেজি পেঁয়াজ, ২ কেজি লবণ, ৪ টা সাবান মিলে ৩ হাজার ২শ টাকা মূল্যের সামগ্রী এবং চিকিৎসা ও সবজি কেনার জন্য নগদ ৭০০ টাকা করে প্রদান করা হয়েছে।   
এসময় উপস্থিত ছিলেন জোনাল ম্যানেজার সিরাজুল ইসলাম, অঞ্চল ব্যবস্থাপক অসীম কুমার দাস,  শাখা ব্যবস্থাপক  মুহাম্মদ শফিকুজ্জামান সেকেন্ড অফিসার আইয়ুব আলী প্রমুখ।

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ভেড়িবাঁধ নিয়ে আতঙ্কিত নির্ঘুম রাত কাটছে কয়রাবাসীর

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ভেড়িবাঁধ নিয়ে আতঙ্কিত নির্ঘুম রাত কাটছে কয়রাবাসীর


  মোহাঃ ফরহাদ হোসেন কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ , ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ নিয়ে আতঙ্ক ক্রমশ বাড়ছে কয়রা উপজেলার উপকূলজুড়ে। বিশেষ করে বেড়িবাঁধ ভাঙা জনপদ কয়রার ৭টি ইউনিয়নের মানুষ জলোচ্ছ্বাসের আতঙ্কে আছেন। নদীর তীরবর্তী বেড়িবাঁধের বাইরে ও বাঁধের কাছাকাছি মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। ১৯ সকাল থেকে কয়রার আকাশ কিছুটা রোদ আবার কিছুটা মেঘলা ভাবছিলো। কিছু সময় থমথমে গুমোট ভাব বিরাজ করছিলো। অসহনীয় ভ্যাপসা গরমে রোজাদার মানুষের ত্রাহি অবস্থা। রাতে ছিলো থমথমে, নিস্তব্ধ ছিলোনা কোন বাতাস। একদিকে চলছে করোনার আতঙ্ক তার ওপর নতুন করে ঘুর্ণিঝড়ের আশঙ্কা—ঝুঁকিপূর্ণ বেঁড়িবাধের শঙ্কা তো সব সময় কয়রা উপকূলের লেগেই আছে এ নিয়ে উপজেলার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক-শঙ্কা চরমে। করোনা আতঙ্কের চেয়েও সাম্প্রতিক ঘূর্ণিঝড় আম্পানের কারণে বেড়িবাঁধ ভাঙনের আতঙ্কে এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছেন খুলনার কয়রায় ১৪টি গ্রামের মানুষ। কপোতাক্ষের জোয়ারের লবণাক্ত পানি ঢুকে পড়লে ঘর-বাড়ি, ফসলি জমিসহ বিভিন্ন স্থাপনা নষ্ট হয়ে যাবে এমন আতঙ্কে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন উপকুলের মানুষ। এতে শঙ্কা নিয়ে দিন কাটছে তীরবর্তী মানুষগুলোর। স্থানীয় এমপির হস্তক্ষেপে স্থানীয়রা ও পানি উন্নয়ন বোর্ড বিভিন্ন সময় বাঁশ ও বালুর বস্তা দিয়ে কোনোমতে রক্ষা করে আসছে এ বাঁধটি। কিন্তু বর্তমানে এ বাঁধের অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। ভাঙনের ফলে বাঁধের উপর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার মতো কোনো সড়ক নেই। যেকোন সময় কয়রা উপজেলার বেড়িবাঁধ ভেঙে প্লাবিত হতে পারে আশপাশের গ্রাম ও শত শত বিঘা জমির ফসল। তবুও কোনো দপ্তরের নজর নেই বাঁধের দিকে এমন অভিযোগ স্থানীয়দের।বিশেষ করে ঝুঁকির মুখে রয়েছে দক্ষিণ বেদকাশি ইউনিয়নের আংটিহারা, খাসিটানা, জোড়শিং, মাটিয়াভাঙ্গা। উত্তর বেদকাশি ইউনিয়নের গাতিরঘেরি, গাববুনিয়া, গাজিপাড়া, কাটকাটা।কয়রা সদর ইউনিয়নের ৬ নম্বর কয়রা, ৪ নম্বর কয়রার পুরাতন লঞ্চঘাট সংলগ্ন এলাকা, মদিনাবাদ লঞ্চ ঘাট, ঘাটাখালি, হরিণখোলা। মহারাজপুর ইউনিয়নের উত্তর মঠবাড়ি, দশালিয়া, লোকা। মহেশ্বরীপুর ইউনিয়নের কালিবাড়ি, নয়ানি, শেখেরটেক এলাকা। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, করোনা ভাইরাসের (কভিড-১৯) চেয়ে নদী ভাঙনে ঘর-বাড়ি হারানোর আতঙ্কে বেশি রয়েছে তারা। গত কয়েকবারের ভাঙনে নিঃস্ব হয়েছে কয়েক হাজার পরিবার। তাদের অভিযোগ, বারবার বলার পরও ভাঙন ঠেকাতে কার্যকর (টেকসই)কোনো পদক্ষেপ নেয়নি কর্তৃপক্ষ। তাঁরা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে কয়রা সদর ও দক্ষিণ বেদকাশী ইউনিয়নের কপোতাক্ষ নদ এ ছাড়া উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। এক ভাঙন আতঙ্কের জনপদে পরিণত হয়েছে কয়রা। নদী ভাঙনে সর্বহারা গোলখালী গ্রামের বাসিন্দা বাশার আলী মোল্লা বলেন, কপোতাক্ষের ভাঙনে আমার পুরো পরিবার নিঃস্ব হয়ে গেছে। আমার মতো আর কেউ যেন নিঃস্ব না হয় সেই দাবি করছি সরকারের কাছে। বাঁধ ভাঙতে ভাঙতে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। জোয়ারের পানি বাড়লে ঘুম নষ্ট হয় হাজারও পরিবারের। দক্ষিণ বেদকাশী ইউনিয়নের আংটিহারা বেড়িবাঁধ ভাঙনকূলের বাসিন্দা ও স্বাধীন সমাজকল্যাণ যুব সংস্থার সভাপতি মোঃ আবু সাঈদ খান বলেন, বর্ষা মৌসুমের আগে ঝুঁকিপূর্ণ স্থানগুলো সংস্কার করা না হলে বেড়িবাঁধ ভেঙে এলাকা প্লাবিত হতে পারে ও কয়রাবাসীকে আইলার মত লোনা পানিতে ভাসতে হতে পারে। এমনকি উপজেলার সর্বদক্ষিণে অবস্থিত দক্ষিন বেদকাশী ইউনিয়নটি বাংলাদেশের মানচিত্র হতে হারিয়ে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে। 


পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) আমাদী সেকশন কর্মকর্তা মশিউল আবেদিন বলেন, কপোতাক্ষ নদের ত্রিমহোনায় গোলখালী বেড়িবাঁধের ভাঙন নতুন কিছু না। এটা পুরানো। তবে বর্তমানে খুব ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় চলে গেছে। আমি বাঁধ এলাকা পরিদর্শন করতে এসেছি। ভাঙন কবলিত এলাকাটি বাংলাদেশের শেষ সীমানায়। এরপর আর বাংলাদেশ নেই। ভাঙনের বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আশা করি অচিরেই সমাধান হবে। স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু বলেন, নদী ভাঙ্গন প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রীসহ পানি সম্পদ মন্ত্রীর সাথে কথা বলেছি এবং কী করে এ বাঁধগুলো স্থায়ী করা যায় এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথেও আমার সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রয়েছে।তিনি আরও বলেন, কয়রায় ঠেকসই বেড়িবাঁধ নির্মানে সরকার মেগা প্রকল্প হাতে নিয়েছে। অতি তাড়াতাড়ি বাধ রক্ষায় কাজ করা হবে।

হবিগঞ্জে কারাগার থেকে বের হয়ে ট্রাক চাপায় আসামীর মৃত্য

হবিগঞ্জে কারাগার থেকে বের হয়ে ট্রাক চাপায় আসামীর মৃত্য



লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ


হবিগঞ্জের কারাগার থেকে জামিনে বের হয়েই দূর্ঘটনায় এক আসামী মৃত্যু বরণ করেছেন জানা যায়, সে আজমিরীগঞ্জে সংঘর্ষের মামলায় জামিন নিয়ে জেল থেকে বের হয়েছিলো। তার নাম ময়না মিয়া (২৮)

জানা যায়, সোমবার (১৮ মে) রাত সাড়ে ১০টায় ধুলিয়াখালে জেল গেট থেকে বের হয়েই ট্রাক চাপায় মারা গেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ২ জন। গুরুতর আহত অবস্থায় ১ জনকে সিলেট অপর জনকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে নিহত ময়না আজমিরীগঞ্জ উপজেলার নোয়াগড় গ্রামের আরজ উল্লার ছেলে স্থানীয়রা জানান। 

আজমিরীগঞ্জের নোয়াগড়ে সম্প্রতি সংঘর্ষের ঘটনায় কারাগারে আসেন নিহত ময়নাসহ ৩ আসামী। সোমবার দুপুরে ভার্চোয়াল আাদলতের মাধ্যমে তাদের জামিন হয়। জামিননামা দেরিতে পৌছার কারনে সন্ধ্যায় তাদেরকে জেল থেকে ছাড়া হয়। জেল থেকে বের হয়ে লকডাউনের কারনে কোন যানবাহন না পাওয়ায় জেল গেইটে অপেক্ষা করতে থাকেন তারা।

এক পর্যায়ে রাত ১০টার দিকে একটি সিএনজি অটোরিক্সাযোগে বাড়িতে যাওয়ার সময় ধুলিয়াখাল বাইপাস সড়কে যাওয়ার মাত্রই বিপরীত দিকে থেকে আসা একটি ট্রাক তাদের বহনকারী সিএনজিকে চাপা দেয় এতে ঘটনাস্থলেই ময়না মিয়া মারা যান। এ ঘটনায় আহত হন আরো ২ জন। গুরুতর আহত অবস্থায় মুছন আলীকে সিলেট ও আরব আলীকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হবিগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা করোনা মুক্ত

হবিগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা করোনা মুক্ত


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: 

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান করোনা ভাইরাস (কোভিড১৯) আক্রান্ত হয়ে হোম আইসোলেশনে থেকেই মুক্ত হয়েছেন।

সোমবার (১৮ মে) রাতে ঢাকা থেকে মনিরুজ্জামানে দ্বিতীয় রিপোর্ট নেগেটিভের আসে। ২০ দিন পর আজ মঙ্গলবার দুপুরে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থথ্য কর্মকর্তা এএইচ এম ইশতিয়াক মামুন নির্বাচন কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান কে করোনা ভাইরাস (কোভিড১৯) মুক্ত হিসেবে ছাড়পত্র দিয়েছন।

গত ২৯ এপ্রিল মাধবপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার মনিরুজ্জামানের করোনা রিপোর্টে পজেটিভ আসে। এর পর তিনি হোম আইসোলেশনে থেকে ডাঃ ইশতিয়াক মামুনের চিকিৎসাধীন ছিলেন। পরপর দুটো ফলো আপ রিপোর্টে মনিরুজ্জামানের নেগেটিভ আসে। শেষ রিপোর্ট আসে গত সোমবার রাতে। মঙ্গলবার দুপুরে করোনা মুক্তর ছাড়পত্র গ্রহনের পর স্বস্তি

কুমিল্লার হোমনা-মুরাদনগর সড়ক বিচ্ছিন্ন করে দিলেন ইউএনও তাপ্তি

কুমিল্লার হোমনা-মুরাদনগর সড়ক  বিচ্ছিন্ন করে দিলেন ইউএনও তাপ্তি


শাহ আলম জাহাঙ্গীর
কুমিল্লা ব্যুরো-

কুমিল্লারমুরাদনগরউপজেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিনদিন বৃদ্ধি পাওয়ায় কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের নির্দেশে মুরাদনগর উপজেলার সাথে হোমনা উপজেলারপ্রধান সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন হোমনা উপজেলা নির্বাহী  অফিসার তাপ্তি চাকমা।
আজ মঙ্গলবার ১৯ মে হোমনা মুরাদনগর সড়কের রঘুনাথপুর সেতুর পশ্চিম পাশে বাঁশ দিয়ে ও বিভিন্ন গাছের ডালপালা  দিয়ে রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছেন হোমনা
উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাপ্তি চাকমা।
তিনি  জানান,মুরাদনগর উপজেলা এখন করোনা ভাইরাসের হটস্পট। আজ মঙ্গলবার  ৩২ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।
এ কারণে  কুমিল্লা জেলা প্রশাসক স্যারের  নির্দেশে মুরাদনগরের সাথে হোমনা উপজেলার সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, হোমনা উপজেলাকে
করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ
থেকে মুক্ত রাখার জন্য নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।
হোমনা উপজেলা সদরসহ
বিভিন্ন শপিংমল ও বিপনী বিতানগুলো বন্ধ করে দিয়েছেন এবং কঠোর মনিটরিং করছেন। ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে অভিযান চালিয়ে ব্যবসায়ীদের সরকারি নির্দেশ ও স্বাস্থ্য অমান্য ককরে দোকান খোলা রাখার অপরাধে অর্থদন্ডও করছেন। 
করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে
ইউএনও তাপ্তি চাকমার প্রচেষ্টা সর্বমহলে প্রশংসিত হচ্ছে।এ সময় উপস্থিত ছিলেন হোমনা থানার ওসি আবুল কায়েস আকন্দ ও ভাষানিয়া ইউপির চেয়ারম্যান মো. কামরুল ইসলাম।

করোনা: গোমস্তাপুরে দোকান ও বাড়ি লকডাউন

করোনা: গোমস্তাপুরে দোকান ও বাড়ি লকডাউন


মো:শামিম উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :
চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলায় প্রথম বারের মত শিশুসহ ২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ায় ২টি বাড়ি ও ২টি দোকান লকডাউন করেছে গোমস্তাপুর উপজেলা প্রশাসন। গতকাল সোমবার স্বাস্থ্য বিভাগের এক রিপোর্টে ২ জন করোনা রোগী সনাক্ত হওয়ায় রাতেই তাদের বাড়ি লকডাউন করা হয়।

এছাড়া আলীনগর ইউনিয়নের নাদেরাবাদ গ্রামের করোনা শনাক্ত ব্যক্তি সোমবার রহনপুর পুরাতন বাজারের দুটি কাপড়ের দোকানে কেনাকাটা করায় ওই দোকান দুটি মঙ্গলবার সকাল থেকে বন্ধ এবং দোকানের মালিক ও কর্মচারীদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সারওয়ার জাহান জানান, হ্যান্ড গ্লাবসের অভাবে আক্রান্ত ২ জনের পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। তবে অচিরেই তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২০০ এতিম শিশুর মাঝে ত্রাণ বিতরণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২০০ এতিম শিশুর মাঝে ত্রাণ বিতরণ


মো:শামিম উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :
চাঁপাইনবাবগঞ্জের সীমান্তবর্তী এলাকায় বসবাসকারী করোনা দুর্যোগ প্রতিরোধে ক্ষুধার্থ ৫টি এতিমখানার ২০০ এতিম শিশুদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছে ৫৯ বিজিবি।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৯ বিজিবি রহনপুর ব্যাটালিয়নের উদ্যোগে তাদের মাঝে রাজশাহী সেক্টর কমান্ডার কর্নেল তুহিন মোহাম্মদ মাসুদ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।


 
শিবগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন সীমান্তের ৫টি এতিমখানার ২০০ এতিম শিশুদের মাঝে চাল, ডাল, তেল, লবণ, আটা, সুজি ও বিস্কুট বিতরণ করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ৫৯ বিজিবি রহনপুর ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মাহমুদুল হাসান, কোম্পানী ও বিওপি কমান্ডারসহ ওই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা।

বিজিবি’র রাজশাহীর সেক্টর কমান্ডার কর্নেল তুহিন মোহাম্মদ মাসুদ জানান, করোনা দুর্যোগে দেশের বিভিন্ন স্থানের ন্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের সীমান্তবর্তী এলাকায় অন্যদের মতো এতিমশিশুদের খাদ্য সংকটের মধ্যে পড়েন। আর সামাজিক দুরন্ত বজায় রেখে খাদ্য সংকটে পরা ২০০ এতিম শিশুদের মাঝে এসব বিতরণ করা হয়।


 
তিনি আরো জানান, বিজিবি সীমান্ত রক্ষার পাশাপাশি সকল পর্যায়ে করোনা দুযোর্গ মহুর্তে যার যার জায়গা থেকে অসহায় শিশুদের সহায়তা করেন আসছে। সর্তক থেকে সবাইকে এক সাথে নিয়ে করোনা যুদ্ধে জয় করার কথাও বলেন।

শিবগঞ্জে ৯শ’ পরিবারে ঈদসামগ্রী দিলেন -ডা. শিমুল এমপি

শিবগঞ্জে ৯শ’ পরিবারে ঈদসামগ্রী দিলেন -ডা. শিমুল এমপি


মো শামিম উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :
করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া খেটে খাওয়া মানুষের দুর্ভোগ লাঘবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে ৬৫০ পরিবারের মধ্যে ঈদসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।
সোমবার দুপুরে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল। শিবগঞ্জ পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড চৌধুরীপাড়া প্রাঙ্গণে এলাকার কর্মহীন পরিবারের  প্রত্যেককে ৩ কেজি চাল, আড়াই কেজি আটা, দেড় কেজি চিনি ও ১ প্যাকেট সেমাই বিতরণ করা হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র কারিবুল হক রাজিন, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি প্রশান্ত সাহা, ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম আজু, শিবগঞ্জ সরকারি মডেল হাই স্কুলের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান, ছত্রাজিতপুর আলাবক্স মেমোরিয়াল ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আতাউর রহমানসহ অন্যরা। এর আগে শিবগঞ্জ ঠিকাদার সমিতি প্রাঙ্গণে ২৫০ পরিবারের মধ্যে ঈদসামগ্রী বিতরণ করেন সংসদ সদস্য ডা. শিমুল।

সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তার নিজ অর্থায়নে দরিদ্রদের মাজে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তার নিজ অর্থায়নে দরিদ্রদের মাজে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ


মোরশেদ আলম
কেশবপুর যশোর প্রতিনিধি। 

যশোর কেশবপুর পৌরসভার  ৩ নম্বর ওয়ার্ডে বায়সা গ্রামে ১৯ মে মঙ্গলবার করোনা ভাইরাসের কারণে অসহায় ও কর্মহীন হয়ে পড়া পরিবারের মাঝে নিজস্ব অর্থায়নে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন, সাবেক ব্যাংক কর্মকতা ও সমাজ সেবিকা রাশিদা খাতুন। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির যুগ্ন-আহবায়ক কামরুজ্জামান, মুকুল হোসোন, আব্দুর রাজ্জাক,আলাউদ্দিন আলা,আব্দুল গফুর প্রমুখ।

সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা রাশিদা খাতুন বলেন দেশের এই ক্রান্তিকালে, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় বিত্তবানরা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলে, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে এই দুর্যোগের মধ্যে সাধারণ মানুষ ঘুরে দাঁড়াতে পারবে। তাই আসুন আমরা কর্মহীন মানুষের পাশে দাড়ায়, তাদের দিকে সাহাস্যের হাত বাড়িয়ে দেয় ৷

কেশবপুরে ছাত্রলীগ নেতার মায়ের ইন্তেকাল

কেশবপুরে ছাত্রলীগ নেতার মায়ের ইন্তেকাল


মোরশেদ আলম
যশোর ভ্রাম্যমাণ  প্রতিনিধি। 

যাশোর কেশবপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক খন্দকার মফিজুর রহমান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক খন্দকার আব্দুল আজিজের মা ফরিদা বেগম (৬৮) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

জানা যায়, ১৯ মে (মঙ্গলবার) সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ফরিদা বেগম বার্ধক্য জনিত কারণে কেশবপুর শহরের ব্রহ্মকাটি গ্রামের নিজ বাস ভবনে মৃত্যুবরণ করে।

এরপর যোহরবাদ জানাযার নামাজ শেষে স্বামীর কবরের পাশে মরহুমাকে ব্রহ্মকাটিস্থ পারিবারিক কবরস্থানে  দাফন করা হয়। 

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক খন্দকার মফিজুর রহমান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক খন্দকার আব্দুল আজিজের মায়ের মৃত্যুতে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ গভীর শোক প্রকাশ এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

আত্রাইয়ে রূপসী নওগাঁ পরিবারের উদ্যোগে দুস্থ অসহায়দের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

আত্রাইয়ে রূপসী নওগাঁ পরিবারের উদ্যোগে দুস্থ অসহায়দের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ



 

মোঃ ফিরোজ হোসাইন  
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর আত্রাইয়ে সেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন ‘রূপসী নওগাঁ’ উদ্যোগে ১০০ হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ মে ) বেলা ১২ টার সময় আত্রাই উপজেলার বান্দাইখাড়া গ্রামে এ ঈদ সামগ্রী বিতরণ করে রূপসী নওগাঁ সংগঠনটি।

এসময় আত্রাই রাণীনগর ও মান্দা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের হতদরিদ্র ১০০ পরিবারের মাঝে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। ঈদ সামগ্রীর মধ্যে ছিল- পোলাও চাল, সেমাই, চিনি, দুধ ও ডিটারজেন্ট পাউডার।

রূপসী নওগাঁ সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা খালেদ বিন ফিরোজের উপস্থাপনায় এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ফিরোজ হোসেন, সাজু রহমান সুজন, জাহিদ হাসান সাদ্দাম প্রমুখ।

এই বিষয়ে রূপসী নওগাঁর প্রতিষ্ঠাতা মোঃ খালেদ বিন ফিরোজ জানায়, রূপসী নওগাঁ সবসময়ই সমাজের অসহায় দুস্থ মানুষের পাশে ছিল আছে এবং থাকবে। তবে আমাদের বর্তমান কোন আয়ের উৎস না থাকায় একক খরচে এইসব কার্যক্রম চালানো অনেক কষ্টকর হয়ে পড়ে। কষ্টকর হলেও আমাদের কার্যক্রম না থামিয়ে আমাদের ওয়াদা মত কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি এরই ধারাবাহিকতায় আজ আত্রাই হতে আমাদের ঈদ সামগ্রী বিতরণ শুরু হয়েছে ।
তিনি আরও জানায়, তাদের পাশে যদি কেউ দাড়িয়ে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করত তবে তারা তাদের অসহায় দুস্থ মানুষদের জন্য নেওয়া ১২ টা কার্যক্রম আরও ভালভাবে বেশী করে করতে পারত।

আত্রাই – রানীনগরে সিএইচসিপিদের মাধ্যমে ঔষধ বিতারন করেন- ইসরাফিল আলম এমপি

আত্রাই – রানীনগরে সিএইচসিপিদের মাধ্যমে ঔষধ বিতারন করেন- ইসরাফিল আলম এমপি

 

মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর রাণীনগরে আজ দুপুর ২ ঘটিকায় রাণীনগর হাউজে নওগাঁ-০৬(আত্রাই-রাণীনগর)এর স্থানীয় সংসদ সদস্য মোঃ ইসরাফিল আলম এমপি তার নির্বাচনী এলাকায় ভিটামিন ডি. ভিটামিন ই, জিংক. প্যারাসিটামল এবং এন্টিহিস্টামিন গ্রুপের ঔষধ বায়োফার্মার সহযোগিতায় এবং এমপির নিজস্ব অর্থায়নে আত্রাই ও রাণীনগর উপজেলার ৪৯ টি কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে গ্রামের দরিদ্র জনগণের জন্য স্বাস্থ্য সেবা ঔষধ কমিউনিটি ক্লিনিক সিএইচসিপিদের হাতে হস্তান্তর করা করেন মোঃ ইসরাফিল আলম এমপি। এমপি ইসরাফিল বলেন-করোনা ভাইরাস জনিত উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ঔষুধ গুলো এন্টিবডি তৈরি করতে এবং করোনা ভাইরাসের প্রভাব মোকাবেলা করতে কার্যকর ভূমিকা পালন করবে।এ সময় উপস্থিত ছিলেন আত্রাই উপজেলা সিএইচসিপি অ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি আব্দুল কদ্দুস এবং রানীনগর সিএইচসিপি অ্যাসোসিয়েন এর সভাপতি                       আক্তারুজ্জামান  উজ্জল।

প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন -এমপি বকুল

প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন -এমপি বকুল



রাজশাহী ব্যুরোঃ
  নাটোরের লালপুরে রাজস্ব খাতের আওতায় প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে লালপুর উপজেলা মৎস্য অফিসের আওতাধীন ৮টি পুকুরে এই মাছের পোনা অবমুক্ত করেন নাটোর-১ (লালপুর-বাগাতিপাড়া) আসনের সংসদ সদস্য শহিমুল ইসলাম বকুল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যুতি, উ

হবিগঞ্জে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের জন্য মাইকিং

হবিগঞ্জে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের জন্য মাইকিং



লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ


করোনাভাইরাসের ঝুঁকি এড়াতে দেশে সাধারণ ছুটি চলাকালে এবার বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের জন্য হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে মাইকিং করা হচ্ছে। গতকাল সোমবার (১৮ মে) বিকেলে বিল দেয়ার জন্য গণহারে এ মাইকিং শুরু হয়। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

মঙ্গলবার (১৯ মে) সরজমিনে উপজেলার সুতাং বাজারে দেখা যায়, পল্লী বিদ্যুতের একটি টিম বিল গ্রহণ করছে। মাইকিং শুনে বিল দিতে আসা অনেকেই সংযোগ কেটে দেয়ার ভয়ে বিল দিতে আসছেন। বিল দিতে আসা গ্রাহকরা মানছেন না কোন সামাজিক দূরত্ব, ফলে থাকছে করোনার ঝুঁকি।

অথচ সরকার দেশে করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি বিবেচনায় ফেব্রুয়ারি-মার্চ-এপ্রিল-২০২০ মাসের বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব ফি (মাশুল) মওকুফ করার সিদ্ধান্ত নেয়। এবং করোনার সংক্রমণ থাকাকালীন সময়ে বিদ্যুৎ বিল জমা না নেয়ার জন্য ঘোষণা দেয়। কিন্তু এসবের কোন কিছুই মানছে না শায়েস্তাগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ অফিস।

এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ পল্লী বিদ্যুতের প্লান্ট ম্যানেজার নুরে আলম জানান, আমরা সব জায়গারই বিল গ্রহণ করছি। গ্রাহকদের সুবিধার কথা চিন্তা করে আমরা বিল নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ ৩-৪ মাসের বিল একত্রে দিতে গেলে গ্রাহকদের অসুবিধা হতে পারে।

আর শায়েস্তাগঞ্জ পল্লী বিদ্যুতের জেনারেল ম্যানেজার মোতাহের হোসেন জানান, আমরা বিল দেয়ার জন্য কাউকেই জোর করছি না এবং বিল না দিলে কারো সংযোগ কাটা হবে না। ব্যাংকে বিল না নেয়ার কারণে আমরা যথেষ্ট পরিমাণ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কোনরকম বিলম্ব ফি ছাড়াই বুথ বসিয়ে বিল গ্রহণ করছি।

সরকার থেকে এই চলমান সংকটে বিল গ্রহণ নিষেধ ছিল এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, পিডিবির অনেক টাকা আমাদের কাছে পাওনা রয়েছে। আমরা বিদ্যুৎ কিনে আনি, সেই বিল দেয়ার জন্যই সরকার থেকে আবার বিল গ্রহণ করার জন্য বলা হয়েছে।

অনির্দিষ্ট কালের জন্যে পিরোজপুরের সকল মার্কেট বন্ধের ঘোষণা

অনির্দিষ্ট কালের জন্যে পিরোজপুরের সকল মার্কেট বন্ধের ঘোষণা


মিঠুন কুমার রাজ,
পিরোজপুর জেলা প্রতিনিধি। 
 আজ ১৯ মে থেকে পিরোজপুর জেলার সকল মার্কেট পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

করোনা মহামারীর সংক্রমণ রোধে দীর্ঘদিন পিরোজপুরের মার্কেট, দোকানপাট সমুহ বন্ধ থাকার পর গত আসন্ন ঈদ ও ব্যবসায়ীদের কথা চিন্তা করে ১০ মে থেকে সরকারি নির্দেশনায় জেলা প্রশাসন কর্তৃক শর্তসাপেক্ষে মার্কেট সমুহ খুলে দেয়া হয়। তবে জনগণের সামাজিক দুরত্ব না মেনে উপচে পরা ভিড়ের কারণে পুনরায় জেলা প্রশাসন কর্তৃক আগামীকাল থেকে মার্কেট সমুহ বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়।
তবে সেক্ষেত্রে ওষুধের দোকান এবং জরুরি সেবাগুলো এই নির্দেশনার আওতায় পড়বে না।

এদিকে জেলা ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা নকিব জানান, জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সাথে জরুরী আলোচনার মাধ্যমে আজ সিদ্ধান্ত হয় যে, আজ ১৯ মে থেকে পিরোজপুর জেলার শুধুমাত্র নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দোকান ছাড়া অন্যান্য সকল দোকানপাট অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ থাকবে।

আবুরহাট স্কুলের ৯১ ব্যাচের উদ্যোগে ৩শ পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার

আবুরহাট স্কুলের ৯১ ব্যাচের উদ্যোগে ৩শ পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার


মিরসরাই প্রতিনিধি
 মিরসরাই উপজেলার ঐতিহ্যবাহী আবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৯৯১ ব্যাচের উদ্যোগে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অসহায় ও কর্মহীন ৩ শত ১০ পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (১৯ মে) সকালে ৯১ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা আবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে কর্মসূচীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এসময় ওই ব্যাচের সাময়িক কর্মহীন হয়ে পড়া ৪ জনকে আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়। আবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সাবেক সভাপতি ও ৯১ ব্যাচের শিক্ষার্থী নুরুল আলমের সার্বিক তত্বাবধানে কর্মসূচী বাস্তবায়নে সহায়তা করেন ৯১ ব্যাচের শিক্ষার্থী সানা উল্ল্যাহ, সাইফুল ইসলাম, নুরুল আবছার, জয়নাল আবেদীন, মহি উদ্দিন, নিরঞ্জন দাশ. ডা. নুর উদ্দিনসহ অন্যান্যরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন মিরসরাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মহি উদ্দিন নিজামী।
ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণের অন্যতম উদ্যোক্তা নুরুল আলম বলেন, আবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয় একটি ঐতিহ্যবাহী বিদ্যালয়। এই বিদ্যালয় থেকে অসংখ্য ব্যাচ ইতিমধ্যে পড়াশোনার গন্ডি শেষ করেছে। সবাই যদি অসহায়দের পাশে দাঁড়ায় তাহলে কোন গরীব, অসহায় কষ্টে দিন যাপন করবে না। আমাদের ব্যাচের উদ্যোগে ভবিষ্যতেও নানা সমাজকল্যাণমূলক কর্মসূচী বাস্তবায়ন করার প্রক্রিয়া চলছে।

মোংলা বন্দরে ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় পণ্য উঠানামা বন্ধ, আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত

মোংলা বন্দরে ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায়  পণ্য উঠানামা বন্ধ,  আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় মোংলা বন্দরে পন্য উঠা-নামার কাজ বন্ধ রয়েছে। বন্দর কর্তৃপক্ষ, উপজেলা প্রশাসন এবং পৌরসভার পক্ষ থেকে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত আছে। ১৯ মে মঙ্গলবার সকালে উপজেলা নির্বাহি অফিসারের কার্য্যালয়ে উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মহাবিপদ সংকেত ৮ হলেই সবাইকে আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে বলা হবে।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষথর চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজান জানান বন্দরের বহিনোর্ঙ্গরে অবস্থান করা ১১টি বাণিজ্যিক জাহাজকে নিরাপদে থাকতে বলা হয়েছে। বন্দরের পন্য উঠা-নামার কাজ বন্ধ আছে। দুটি কন্ট্রোল রুম সার্বক্ষণিক ঘূর্ণিঝড় আম্পান এর গতিবিধি এবং তা মোকাবেলার কাজে নজর রাখছে। বর্তমানে বন্দরের নিজস্ব এলার্ট থ্রি জারি আছে। মহাবিপদ সংকেত ৮ ঘোষাণা করার সাথে নিজস্ব এলার্ট ফোর জারি করা হবে। উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাহাত মান্নান জানান মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার। সভায় মোংলা নৌ কন্টিনজেন্ট কমান্ডার লেঃ আরিফুল ইসলাম, থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল চৌধুরী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ১০৩ টি আশ্রয়কেন্দ্রকে জীবানুমুক্ত করে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। মহাবিপদ সংকেত ৮ হলেই সবাইকে আশ্রয়কেন্দ্রে নেয়া হবে। আশ্রয়কেন্দ্রে শুকনা খাবার এবং সেহরী খাওয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এছাড়া প্রায় দুই হাজার স্বেচ্ছাসেবক ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় সার্বক্ষণিক মাঠে আছে। অন্যদিকে কোস্টগার্ড সূত্রে জানাগেছে সুন্দরবনে জেলেদের নিরাপদে থাকার জন্য কোস্ট গার্ডের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়েছে। সুন্দরবন এবং উপকূলে কোস্ট গার্ডের ১৪টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত আছে। আশ্রয়কেন্দ্র গুলিতে কোস্ট গার্ডের পক্ষ থেকে জেলেদের খাদ্য সরবরাহ করা হবে। সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগ বাগেরহাটের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ বেলায়েত হোসেন জানান বন বিভাগের কর্মকর্তা ও জেলেদের নিরাপদে থাকতে বলা হয়েছে। মোংলাপোর্ট পৌরসভার পক্ষ থেকে সার্বক্ষনিক কন্ট্রোল রুম খোলা রাখার পাশাপাশি জনসচেতনতামূলক মাইকিং করা হচ্ছে।

ঝিকরগাছায় ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের শুভ উদ্বোধন

ঝিকরগাছায় ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের শুভ উদ্বোধন

মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত, ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ
বাংলাদেশ ত্রান ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় কতৃক ত্রাণসামগ্রী বিতরনের শুভ উদ্বোধন করা হয়।

দেশের ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় থেকে প্রাপ্ত ত্রাণসামগ্রী ঝিকরগাছা উপজেলার অন্তর্গত  ঝিকরগাছা সদর ইউনিয়নের কর্মহীন, গরীব ও দুঃখী মানুষের মাঝে বিতরণ উদ্বোধন করেন ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা, ঝিকরগাছা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমির হোসেন, ঝিকরগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা আরিফ রহমান, ইকরামুল করিম সৈকত, সিহাব উদ্দিন রাজ, অত্র ইউনিয়ন পরিষদের সকল ওয়ার্ডের মেম্বার, ইউনিয়ন পরিষদের গ্রামপুলিশ সহ অনেকে।

নওগাঁয় গৃহবধু গলায় ফাঁস দিয়ে মৃত্য

নওগাঁয় গৃহবধু গলায় ফাঁস দিয়ে মৃত্য


মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর আত্রাইয়ে
 পারিবারিক কলহে অন্তসত্তা বধু চায়না রানী (২০) গলায় ফাঁস দিয়ে মৃত্যর খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি উপজেলার হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের বড়দাপাড়া গ্রামে সোমবার রাতে ঘটেছে। ময়না তদন্তের জন্য লাশ উদ্ধারকরে নওগাঁ মর্গে পাঠিয়েছে আত্রাই থানা পুলিশ।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে, বিয়ের পর হতে চায়না রাণীকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছিলো পরিবারের লোকজন। মেয়ের পরিবারের ধারণা ছিলো সন্তান হলে তাদের সমস্যাগুলো লাঘব হবে কিন্তু ৭ মাসের অন্তসত্তা হবার পরও বিভিন্ন নির্যাতনের স্বীকার হতে হয়েছে মৃত চায়না রাণীকে। 
অন্যান্য দিনের ন্যায় সোমবার রাতে চায়নার স্বামী নির্যাতন করে রুগী দেখার নাম করে বাহিরে চলে গেলে জীবনের মানে খুজে না পেয়ে শয়নঘরে ফ্যানের সাথে ওরনা জড়িয়ে আত্নহত্যা করে চায়না। স্বামী  ষষ্ঠি কুমার আনুমানিক রাত্রি ১টার দিকে বাড়ীএসে ঘড়ের দরজা ভেতর থেকে আটকানো দেখে এবং ডাকাডাকি করলে কোন সাড়া না পেয়ে জানালা দিয়ে উঁকি দিয়ে ফ্যানের সাথে চায়নাকে ঝুলতে দেখে। চিতকার শুনে প্রতিবেশিরা এসে ঘড়ের টিন খুলে মৃতদেহ উদ্ধার করে। বিষয়টি নিয়ে চায়নার আত্নীয় ও প্রতিবেশিরা বিভিন্ন প্রশ্ন তুলেছে।
আত্রাই থানা ওসি মোসলেম উদ্দিন বলেন, ময়না তদন্তের জন্য লাশ নওগাঁ মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিপোট এলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নওগাঁয় প্রশাসনের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত

নওগাঁয় প্রশাসনের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত


মোঃ ফিরোজ হোসাইন
রাজশাহী ব্যুরো

 নওগাঁর আত্রাইয়ে কওমি মাদ্রাসা শিক্ষকদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলা পরিষদ মাঠে এর উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ছানাউল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব  এবাদুর রহমান প্রামানিক, এসিল্যান্ড আরিফ মুর্শেদ মিশু প্রমুখ।
জানা গেছে, করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে চাল, সেমাই, দুধ,সাবান, তেল ঈদ সামগ্রী একশ দশ জন কওমি মাদ্রাসা শিক্ষকের মাঝে প্রদান করা হয়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ছানাউল ইসলাম বলেন, উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মোঃ ইসরাফিল আলম করোনা পরিস্থিতির শুরু থেকে অসহায় কর্মহীন মানুষের পাশে থেকে তাদের দুর্দশা লাঘবে সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছে। এর ধারাবাহিকতায় আজ কওমি মাদ্রাসা শিক্ষকদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।

অনিয়মের অভিযোগে টিসিবির পণ্যবাহী ট্রাক সহ মালামাল জব্দ

অনিয়মের অভিযোগে  টিসিবির পণ্যবাহী ট্রাক সহ মালামাল জব্দ



রাজশাহী ব্যুরো
নাটোরের লালপুরে খোলা বাজারে টিসিবির পণ্য বিক্রয়রে সময় নিয়ম অনুসারে পণ্য সামগ্রী না থাকায় ট্রাক সহ মালামাল জব্দ করা হয়েছে । মঙ্গলবার সকালে গোপালপুর পৌরসভা এলাকার আজিমনগর রেলওয়ে স্টেশনের কদমতলা নামক স্থানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যূতি সরজমিনে এসে টিসিবির পণ্য বিক্রয় কালে সে তদন্ত করার সময় ৩৮ লিটার সোয়াবিন তেল সহ বোতল, পিঁয়াজ ৬০ কেজি নিয়ম অনুসারে কম পাওয়া পাই । এছাড়া যেখানে ১৬ বস্তা চিনি থাকার নিয়ম থাকলেও চিনি খালি বস্তা ১৭ টি বস্তা দেখানো হয়, ডাউলের হিসাব পাওয়া যায়নি ।

বিষয়টি তদন্ত করে পণ্য সামগ্রী না থাকায় ট্রাক সহ মালামাল জব্দ করে লালপুর থানায় হস্তাতর করেন । এবিষয়ে গোপালপুর পৌর ছাত্রীলীগের আহবায়ক উপল কুমার পাল (সজল) বলেন, কয়েক দিন আগে আমরা শুনেছি। টিসিবির পণ্য সামগ্রী নিয়ম অনুসারে কম রাখা হচ্ছে , মঙ্গলবার সকাল থেকেই আমরা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা টিসিবির পণ্য বিক্রয় কালে ঘটনা স্থলে থাকি এবং ডিলার শরিফুল ইসলাম কার্তিক কে ফোনে জিজ্ঞাসা করি যে আপনার পণ্য সামগ্রী কম আছে কি ? প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আমাদের কোন পণ্য কম নাই ।
ছাত্রলীগের আহ্বায়ক তিনি আরো বলেন, পরে আমাদের সন্দেহ হলে স্থানীয় সাংবাদিক বৃন্দু সহ উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি অবগত করি । একাধিক ভুক্তভোগী দাবি করেন তার এধরনের কমকান্ডের জন্য কঠোর শাস্তি হওয়া দরকার ।

এবিষয়ে লালপুর থানার ওসি সেলিম রেজা বলেন, বিষয়টির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে ।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যূতি ঘটনা স্থলে বলেন, আপনারা তো নিজেরাও দেখছেন ,টিসিবিরি পণ্য সামগ্রী জব্দ করে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে । তিনি আরো বলেন, ডিলারের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা হবে ।

বনপাড়া পৌরসভায় ইমাম, খতিব ও মোয়াজ্জিনদের সন্মানী প্রদান

বনপাড়া পৌরসভায় ইমাম, খতিব ও মোয়াজ্জিনদের সন্মানী প্রদান



রাজশাহী ব্যুরো
নাটোরে বড়াইগ্রামের বনপাড়া পৌরসভার উদ্যোগে পবিত্র ঈদ উল ফিতর উপলক্ষে পৌর এলাকার ইমাম, খতিব ও মোয়াজ্জিনদের সন্মানী প্রদান করা হয়। সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে পৌর মিলনায়তনে বনপাড়া পৌর মেয়র কে.এম জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে মঙ্গলবার আয়োজিত অনুষ্ঠানে ৯৩ জনকে ৯৩ হাজার ১ শ' টাকা প্রদান করা হয়। তারমধ্যে ইমামদের ১২০০ টাকা করে ৪৫ জনকে, খতিবদের ১২০০ টাকা করে ১১ জনকে ও মোয়াজ্জিনদের ৭০০ টাকা করে ৩৭ জনকে প্রদান করা হয়। সেখানে উপস্থিত  ছিলেন পৌর কাউন্সিলরগণ সহ পৌর সচিব আব্দুল হাই, বনপাড়া ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অদ্ধাপক মো.মোয়াজ্জেম হোসাইন, উপজেলা মসজিদের প্রেস ইমাম আব্দুল মান্নান প্রমুখ।

ঝিকরগাছায় ধান ক্রয়ের জন্য লটারীর ড্র!

ঝিকরগাছায় ধান ক্রয়ের জন্য লটারীর ড্র!

মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ 

সরকারি মূল্যে বোরো ধান ক্রয়ের লক্ষ্যে ২১,৮৮৬ জন বোরো ধান চাষীর তালিকা হতে লটারীর মাধ্যমে ২৫৭৪  মে.টন বোরো ধান ক্রয় করার জন্য ঝিকরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমি মজুমদার এর সভাপতিত্বে উপজেলা কনফারেন্স রুমে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান সংগ্রহ ২০২০ মৌসুমে কৃষক নির্বাচনের জন্য উন্মুক্ত লটারী অনুষ্ঠানে
প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ সেলিম রেজা।

উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বৃন্দ, অতিরিক্ত কৃষি কর্মকর্তা মাহাবুব আলম রনি, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক অফিসার সন্দীপ কুমার দাশ, উপজেলা খাদ্য গুদাম (এল এস ডি) অফিসার প্রবোধ কুমার পাল,উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আরিফ রহমান, নাইমুর রহমান হৃদয়, সৈকত, সোহেল, সজীব, রাহুল প্রমুখ।

শ্যামনগরের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান লেলিন গ্রেফতার

শ্যামনগরের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান লেলিন গ্রেফতার


আজহারুল ইসলাম সাদী, সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ

শ্যামনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য, গাবুরা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান,  জি,এম শফিউল আযম লেনিনকে শ্যামনগর থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

জানা গেছে মঙ্গলবার ১৯ মে -২০২০ বেলা ৩ টার দিকে কালিগঞ্জ পুলিশ সার্কেল (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার) জামিরুল ইসলাম জামির নেতৃত্বে শ্যামনগর থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। 
তিনি গাবুরা ইউনিয়নের গাইন বাড়ির মৃত নওশের আলম গাইনের বড় ছেলে।
শ্যামনগর থানার ওসি নাজমুল হুদা জানান, ঘুর্ণিঝড় উপলক্ষে গাবুরায় পুলিশের সরকারি কাজে বাধা প্রদান সহ সরকারের নীতির কঠোর সমালোচনা করার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করে সাতক্ষীরা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) তে হস্তান্তর করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানা গেছে।

কুমিল্লার হোমনায় ১২ শ' অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী উপহার দিলেন আমেরিকা প্রবাসী দেলোয়ার হোসেন মমিন

কুমিল্লার হোমনায় ১২ শ' অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী উপহার দিলেন আমেরিকা প্রবাসী দেলোয়ার হোসেন মমিন

শাহ আলম জাহাঙ্গীর 
কুমিল্লা ব্যুরো

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশক্রমে কুমিল্লার হোমনা উপজেলার চান্দেরচর ইউনিয়নের কর্মহীন  অসহায় দরিদ্র ১২০০ পরিবারের মাঝে নিজ অর্থায়নে ঈদ উপহার হিসাবে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন
মাইজচর গ্রামের ঐতিহ্যবাহী মমিনবাড়ির আমেরিকা প্রবাসী দেলোয়ার হোসেন মমিন।

 মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় দুঃস্থ, দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন সরকারপ্রধান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই নির্দেশ মোতাবেক অাজ ১৯ মে মঙ্গলবার চান্দেরচর ইউনিয়নের ১২ শ দরিদ্র পরিবারের মাঝে নিজস্ব অর্থায়নে  ঈদকে সামনে রেখে উপহার সামগ্রী পৌঁছে দেবার ব্যবস্থা করেন উপজেলার চান্দের চর ইউনিয়নের মাইজচর গ্রামের ঐতিহ্যবাহী মমিন বাড়ির মৃত ছিদ্দিকুর রহমান মমিনের ছোট ছেলে অামেরিকা প্রবাসী দেলোয়ার হোসেন মমিন। উপহার সামগ্রীর মধ্যে ছিলো চাল,অাটা,চিনি,গুঁড়া দুধ ও লবণ।

 অাজ মঙ্গলবার সকাল ৮ টায় সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে ইউনিয়নের অন্তর্গত পাড়াতলী গ্রামের দরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণের মধ্য দিয়ে  বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রবাসী মোঃ দেলোয়ার হোসেন মমিনের বড় ভাই,  চান্দেরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য মোঃ হারুন মমিন।
এসময় অারো উপস্থিত ছিলেন চান্দেরচর ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মোঃ ফারুক মমিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান, থানা আওয়ামীলীগের সদস্য ডাঃ আব্দুর রহিম, উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য মোঃ রকিবুল হাসান, ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার মুজিবুর রহমান, হোমনা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি জামশেদ সরকার হিমেল,মোঃ আবুল খায়ের মমিন, আরিয়ান মমিন প্রমুখসহ, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্থানীয় গন্যমান্য  ব্যক্তিবর্গ।

 সমাজসেবক আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ হারুন মমিন বলেন,মহামারী করোনা ভাইরাসের এই দূর্যোগকালীন দুঃসময়মোকাবেলায়,গনতন্ত্রের জননী বঙ্গবন্ধু কন্যা সফল প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নিজ নিজ সামর্থ্যনুযায়ী অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর যে নির্দেশ দিয়েছেন তা আমরা পালন করছি।ইনশা' অাল্লাহ অামাদের সাধ্যমতো এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় জনগনের পাশে অাছি এবং থাকবো। আমেরিকা প্রবাসী তার ছোট ভাই দেলোয়ার হোসেন মমিনের জন্য সকলের কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন।এ সময় তিনি উপস্থিত সকলকে সরকারি নির্দেশনা মেনে ঘরে থাকার অনুরোধ করেন জানান।

দেশের একটি মানুষও যাতে খাদ্যে কষ্ট না পায় সে জন্যে পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে- হবিগঞ্জে বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

দেশের একটি মানুষও যাতে খাদ্যে কষ্ট না পায় সে জন্যে পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে- হবিগঞ্জে বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি।

মহামারি করোনা নিয়ে আজ বিশ্ববাসী চিন্তিত। পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশে করোনায় বিপর্যস্ত। বাংলাদেশেও করোনায় আঘাত হেনেছে। সরকার করোনার সংক্রামণ ঠেকাতে সময়মত ব্যবস্থা নেওয়া এর প্রভাব অনেকটায় নিয়ন্ত্রিত। করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে সমূখ সারির যোদ্ধা ডাক্তার পুলিশ।

সাংবাদিক সহ অনেক মানু্ষ প্রাণ দিয়েছেন। দেশের একটি মানুষও যাতে খাদ্যে কষ্ট না পায় সে জন্য অনেক প্রদক্ষেপ গ্রহন করেছেন।মসজিদের ইমাম এতিম পরিবহন শ্রমিক,সহ কর্মহীন মানুষকে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রেখেছেন কৃষি শিল্প ব্যবসা বাণিজ্য সচল রাখতে সহ শর্ত ঋন ও প্রনোদনা ঘোষনা করেছেন আগামী বাজেটে করোনা পরিস্থিতি ওপড় নজর রেখে বাজেট ঘোষনা করা হবে তবে স্বাস্থ্যবিধি সবাইকে মেনে চলতে হবে তিনি 

মঙ্গলবার (১৯-মে) সকালে হবিগঞ্জের মাধবপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও মৌলানা আসাদ আলী কলেজ মাঠে কর্মহীন কয়েক শতাধিক মানুষের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ কালে উপরোক্ত কথা বলেন। এ সময় উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা তাসনূভা নাশতারান, সহকারী পুলিশ সুপার(মাধবপুর সার্কেল) নাজিম উদ্দিন (ওসি) ইকবাল হোসেন প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাসুদুল আলম চেয়ারম্যান ফারুক পাঠান তৌফিকুল আলম চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

শৈলকুপাই গরীব কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল শৈলকুপা উপজেলা বি এন পি

শৈলকুপাই গরীব কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল শৈলকুপা উপজেলা বি এন পি

সম্রাট হোসেন শৈলকুপা উপজেলা(ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃ আজ ১৯/০৫/২০২০ কেন্দ্রীয় বি এন পির সহসাংগঠনিক সম্পাদক বাবু জয়ন্ত কুমার কুণ্ডর নির্দশে শৈলকুপা উপজেলা ইটালি গ্রামে জমীর উদ্দিনের দেড়বীঘার ধান কেটে দিলেন শৈলকুপা উপজেলা বিএনপি, যবুদল ছাত্রদল ও সেচ্ছাসেবক দল। এই সময় উপস্থিত ছিলেন শৈলকুপা উপজেলা বি এন পির যুগ্ন আহাব্বায়ক মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, শৈলকুপা উপজেলা যুবদলের নেতা, মকুল, শাহীন,আনিচ ও উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি পদপ্রার্থী মোঃলিটন সহ আরাও ৬০/৭০ জন নেতা কর্মী।

দুঃসময়ে যারা মানুষের পাশে দাঁড়ায় না তারা প্রকৃত রাজনীতিবীদ নন- হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি

দুঃসময়ে যারা মানুষের পাশে দাঁড়ায় না তারা প্রকৃত রাজনীতিবীদ নন- হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি


দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থাকতে দেশের যে কোন দুর্যোগকালে কেউ না খেয়ে থাকেনি, ভবিষ্যতেও থাকবে না । প্রধানমন্ত্রী ঘরে ঘরে খাদ্য পৌছে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। অসহায় ও দরিদ্ররা যেন অভাব বুজতে না পারে সে জন্য ১০ টাকা কেজি চাল ও ১৮ টাকা কেজি দরে আটা দেয়া হচ্ছে। পর্যাপ্ত পরিমান খাদ্য মজুদ রয়েছে। সরকারের  খাদ্য নিরাপত্তার আওতায় ৬ কোটি মানুষকে খাদ্য সহায়তা দেয়া হচ্ছে। ৫০ লাখ মানুষকে ২৫০০ টাকা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মোবাইল ব্যাংককিং এর মাধ্যমে অর্থ প্রদান করেছেন। তিনি বলেন, বিএনপি এসব দেখে আবল-তাবোল বকছে। তারা নিজেরাই অসহায় মানুষের পাশে না থেকে উস্কানিমুলক বক্তব্য দিচ্ছে।  তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে খালেদা-তারেক হাওয়া ভবন সিন্ডিকেট করে হাজার হাজার কোটি টাকা আত্মসাত করেছেন এবং বিদেশেও পাচার ও বাড়ী গাড়ির মালিক হয়েছেন। আজকে দুঃসময়ে খাদ্য সহায়তা নিয়ে তারা জনগনের পাশে নেই। তাদের ত্রান ও খাদ্য সহযোগিতা মিডিয়ার মধ্যে সীমাবদ্ধ। জনগনের দুঃসময়ে যারা মানুষের পাশে দাঁড়ায় না তারা প্রকৃত রাজনীতিবীদ নন। তাদেরকে ভবিষ্যতে চিহিৃত করে রাখতে হবে। তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন পর্যন্ত দেশের মানুষের জন্য কাজ করে যাবেন। করোনা ভাইরাস থেকে একদিন আমরা স্বাভাবিক জীবন ফিরে পাবো ইনশাল্লাহ। সেজন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে ঘরে থাকার আহবান জানান। 
১৯ মে মঙ্গলবার দিনাজপুর কেবিএম কলেজ প্রাঙ্গনে করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় ও দরিদ্র প্রায় ৫০০ ভ্যান চালকদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার খাদ্য সামগ্রী বিতরনকালে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি এ সব কথা বলেন। এ ছাড়া তিনি দিনাজপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স জেলা শাখা ও বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদ জেলা শাখার উদ্যোগে অসহায়, বেকার, বেতন হীন ডিপ্লোমা প্রকৌশলী, নির্মাণ শ্রমিক ও দু:স্থ মানুষেরমাঝে ত্রান, তফিউদ্দিন মেমোরিয়াল স্কুলে ও আউলিয়াপুর ইউনিয়নে ত্রান সামগ্রী বিতরন করেন। 
পৃথক পৃথক অনুষ্ঠানে সময় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ইমদাদ সরকার, শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক খালেকুজ্জামান রাজু, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার লোকমান হাকিম, মুক্তিযোদ্ধা আকবর আলী, দিপই অধ্যক্ষ ওয়াদুদ মন্ডল, শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক খালেকুজ্জামান রাজু, আইডিইবির সভাপতি মতিউর রহমান, সাধারন সম্পাদক আব্দুল আউয়াল, সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম, পি ডাব্লিউ ডি’র এসডিই দিলদার আহমেদ, আলহাজ্ব সাইফুল ইসলাম, আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাড. জাকির হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা মাজেদুর রহমান ডাব্লু, সাদেকুল ইসলাম প্রমুখ।

হবিগঞ্জে বিষপানে গৃহবধূর মৃত্যূ স্বজনদের দাবী হত্যা

হবিগঞ্জে বিষপানে গৃহবধূর মৃত্যূ স্বজনদের দাবী হত্যা


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি 

হবিগঞ্জ পৌর এলাকার উমেদনগরে বিষপান করে শাহিনা আক্তার (২২) নামে এক গৃহবধূ মারা গেছে এ ঘটনায় পরস্পর বিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় দুই 
মাস পূর্বে মাধবপুর উপজেলার ছানভাঙ্গা গ্রামের শাহিনা আকার ২২ এর বিয়ে হয় পৌর এলাকার উমেদনগর গ্রামের ইমরান মিয়ার সাথে। বিয়ের পর তাদের দাম্পত্য জীবনে কলহ লেগে ছিল। গতকাল বিকেলে শাহিনা বিষপান করে ছটফট শুরু করে। পরিবারের লোকজন তাকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন।

এ দিকে নিহত শাহিনার বাড়ির লোকজন খবর পেয়ে সদর হাসপাতালে ছুটে আসেন। এ সময় তারা তাদের কন্যাকে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ করেন। অপর দিকে শাহিনার শ্বশুর বাড়ির লোকজন জানিয়েছেন শাহিনা বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে। তবে হাসপাতালের চিকিৎসক জানিয়েছেন শাহিনাকে বিষাক্রান্ত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে।

দিনাজপুরে ২ জন পুরাতন রোগীসহ নতুন করোনা আক্রান্ত ১০ জন

দিনাজপুরে ২ জন পুরাতন  রোগীসহ নতুন করোনা আক্রান্ত ১০ জন

দিনাজপুর প্রতিনিধি :দিনাজপুর জেলায় নতুন আরো ১০ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। এছাড়াও পুরাতন আরো ২জনের করোনা শনাক্তের রির্পোট পজিটিভ এসছে। এনিয়ে   সদর উপজেলায় নতুন ৮ জন এবং বিরলে ১জন ও বোচাগঞ্জ উপজেলায় ১ জনসহ মোট ১০ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। 

এই নিয়ে দিনাজপুর জেলায় (কোভিড-১৯) পজিটিভ সংখ্যা সর্বমোট পূর্বে ৮৩ + ১০ (বর্তমানে) = ৯৩ জন এর মধ্যে ৭০ জন পুরুষ ও ২০ জন মহিলা এবং ৩ জন শিশু।

গত সোমবার রাত ৮ টায় দিনাজপুর সিভিল সাজর্ন মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ জানান, আক্রান্ত ১০ জনের মধ্যে দিনাজপুর সদর উপজেলায় ৫ জন পুরুষ ও ৩ জন মহিলা উভয়ের বয়স ১৪ থেকে ৪৫ এর মধ্যে এবং বিরল উপজেলায় ১ জন বয়স ৩১ আর বোচাগঞ্জ উপজেলায় ১ জন বয়স ৪০। বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছে।

গত ২৪ ঘন্টায় ১০৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য মেডিকেল কলেজের পিসিআর-টি ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। গতকাল পর্যন্ত দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের ল্যাব থেকে মোট ১৫২ জনের নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে এর মধ্যে ১০ টি নতুন করোনা (কোভিড-১৯) পজিটিভ ও পূর্বের রোগীর ২ টি ফলোআপ পজিটিভ এসেছে আর বাকী ১৪০ টি ফলাফল নেগেিেটভ। অদ্যাবধি ল্যাবটেরিতে প্রেরিত নমুনার সংখ্যা ২১৩২ টি এবং অদ্যাবধি ফলাফল পাওয়া নমুনার সংখ্যা ২০৭৮ টি। 

সর্ব মোট ৮৩ জন ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর মধ্যে (দিনাজপুর সদর-২৫ জন, কাহারোল-৭ জন, বোঁচাগঞ্জ-৬ জন, ফুলবাড়ী-২ জন, পার্বতীপুর-৫ জন, নবাবগঞ্জ-৬ জন, ঘোড়াঘাট-১৯ জন, হাকিমপুর-২ জন, চিরিরবন্দর-১ জন, বিরল-৯ জন, বিরামপুর-৪ জন, বীরগঞ্জ-৬ জন ও খানাসামা-১ জন)  মোট ১৩টি উপজেলায়। 

বর্তমানে মোট ১৪ জন সুস্থ হয়েছেন তার মধ্যে সদরে-৫ জন, ফুলবাড়ী-১ জন, নবাবগঞ্জ-৩ জন, পার্বতীপুরে-১ জন, কাহারোল-১ জন, হাকিমপুর-১ জন, বোঁচাগঞ্জে-১ জন এবং সর্বশেষ ঘোড়াঘাট-১ জন। মৃত্যু বরন করেছেন ১ জন।

বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ৭০ জন, অদ্যাবধি প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে ৩ জন এবং এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি-৫ জন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য অনুসারে হোম কোয়ারেন্টাইনে ৭৬৫৩ জনের মধ্যে ৫৭৫৮ জন সুস্থ থাকায় অব্যাহতি পেয়েছে। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনের সংখ্যা দাড়িছে ১৮৯৫ জন।

গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে দিনাজপুর জেলায় ২১৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইন গ্রহন করেছে। অদ্যাবধি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে প্রেরিত হয়েছেন ২৩৫ জন এবং প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন থেকে অব্যাহতি পেয়েছে ১৭৬ জন। বর্তমানে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৫৯ জন।

উল্লেখ্য গতকাল দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে চার জেলার সর্বমোট ১৮৮টি নমুনার ফলাফল হয়েছে তার মধ্যে ১৮টি পজিটিভ এবং ১টি ইনভেলিট আর ১৬৯ টি ফলাফল নেগেটিভ এসেছে।

ডিমলায় ত্রান সহায়তা নিয়ে ছুটে চলা একজন চেয়ারম্যান ময়নুল হক

ডিমলায়   ত্রান সহায়তা নিয়ে ছুটে চলা একজন চেয়ারম্যান  ময়নুল হক

মোঃ হাবিবুর রহমান শাকিল ডিমলা নীলফামারী প্রতিনিধি: 


করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন ও অসহায় পরা অভাবী মানুষের মাঝে  ত্রাণ সহায়তা নিয়ে অবিরাম ছুটে চলা নীলফামারী জেলা ডিমলা উপজেলার একজন আলোকিত মানুষ টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব মোঃ ময়নুল হক। দেশের বিভিন্ন এলাকার জনপ্রতিনিধিগন ত্রান চুরির ঘটনায় বরখাস্ত হলেও এক্ষেত্রে সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব মোঃ ময়নুল হক। একজন  জন প্রতিনিধি হিসেবে চষে বেড়াচ্ছেন গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে যা ইতিমধ্যে ইউনিয়ন বাসিদের মূখে মূখে।মূত্যুর ভয়কে উপেক্ষা করে গরীব অসহায় মানুষের দুয়ারে দুয়ারে সরকারি ও ব্যক্তিগত ত্রান পৌঁছে দিচ্ছেন তৃনমুল থেকে উঠে আসা চেয়ারম্যান ময়নুল হক।

প্রথমে দেশে করোনা ভাইরাস প্রার্দুভাব দেখা দেওয়ার পরপরই নিজ ইউনিয়নে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সচেতনতামূলক প্রচার, লিফলেট ও মাস্ক বিতরন করেন তিনি। এরপর দেশে করোনা ভাইরাস বিস্তৃত ঘটলে সরকার গোটা দেশকে লকডাউন ঘোষনা করে। এর ফলে কর্মহীন হয়ে পড়ে ঘরবন্দি শ্রমজীবী মানুষ। এসময় ঘরবন্দি অসহায় দরিদ্র মানুষের বাড়ী বাড়ী গিয়ে খোজ খবর নেন এবং প্রধানমন্ত্রীর ত্রান তহবিল থেকে পাওয়া উপহার সামগ্রীসহ ব্যক্তিগত উদ্দ্যোগে ত্রান বিতরন করেন চেয়ারম্যান জনাব মোঃ ময়নুল হক। এ পর্যন্ত তিনি সরকারিভাবে 2 হাজার ২ শত ৮৩ জনের মাঝে ১০ কেজি করে চাল ও ৩০ হাজার ৩ শত ৬০ টাকা বিতরনসহ ৩ শত ৯৫ জন দুস্থ অসহায় মহিলার মাঝে ৩০ কেজি করে ভিজিডির চাল বিতরন করেন। এছাড়াও ব্যক্তিগত উদ্দ্যোগে ৫ শত পরিবারের মাঝে চাল ও নগদ অর্থ বিতরন করেন তিনি। চেয়ারম্যান সম্পর্কে ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ জনগণ জানান, দেশে যখন চেয়ারম্যান মেম্বার কর্তৃক ত্রান চুরির ঘটনা ঘটছে সেখানে  টেপাখড়িবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক  সরকারি ত্রানের পাশাপাশি ব্যক্তিগত ভাবে বিপুল সংখ্যক মানুষকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করে চলেছেন। তার কর্মকাণ্ডে এলাকার মানুষ সন্তোষ প্রকাশ করেন বলে তারা জানান। এদিকে ডিমলা উপজেলার সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ছাড়াও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও সাধারন মানুষ চেয়ারম্যান ময়নুল হকের
 কর্মকান্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং তার সফলতা কামনা করেন। এছাড়া ওই এলাকার জনগণ বলেন, নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে ইউনিয়নের সর্বত্র কাজ করে যাচ্ছেন চেয়ারম্যান ময়নুল হক। কৃষক জেলে শ্রমিকসহ নানান পেশার মানুষের সুখ-দুঃখে পাশে দাড়াচ্ছেন। এছাড়াও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের সাথে নিয়ে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছেন তিনি। চেয়ারম্যান ময়নুল হক বলেন, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই উন্নয়ন-অগ্রগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সেই উন্নয়নের সহযোগী হয়ে টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নে কাজ করে যাচ্ছি। আমাকে ১ম বারের মত চেয়ারম্যান নির্বাচিত করায় ইউনিয়নবাসীর কাছে আমি কৃতজ্ঞ; তাদের প্রত্যাশা পুরণে সবসময় সেবা দিয়ে পাশে থেকে কাজ করে যেতে চাই। এছাড়া জনগন  বলেন,  স্বচ্ছতায় ও জনগণের কাছে দায়বদ্ধতায় , মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত ২৫০০ টাকা আর্থিক  সহযোগিতায়  ওই ইউনিয়নের  তালিকাভুক্তদের নামের তালিকা   নোটিশ বোর্ডে টাঙ্গিয়ে দিয়েছেন।

চৌগাছায় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ালেন ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা- সবুজ

চৌগাছায় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ালেন ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা- সবুজ


স্টাফ রির্পোটারঃ  
যশোর জেলার চৌগাছা উপজেলার  করোনায় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ালেন ইউনিয়ন ছাত্রলীগ। জানা যায়  ২ নং পাশাপোল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতারণে আর্থিক সহযোগিতায়  বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ ওমর ফরুক ভাই। 

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের প্রকোপে প্রায় সব মানুষ গৃহবন্দি। দেশজুড়ে অঘোষিত লকডাউনের পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বিপাকে পড়েছে নিম্নবিত্তরা। তিন বেলা খাবার জুটাতে রীতিমতো সংগ্রাম করতে হচ্ছে তাদের। এমন অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন যশোরের চৌগাছা উপজেলার ২নং পাশাপোল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মো. সবুজ হোসেন ও আর্থিক সহযোগিতায় ঈদ সামগ্রী বিতারণ বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ ওমর ফারুক ভাই।


নিজ উদ্যোগে গত ৭ এপ্রিল থেকে প্রতিদিনই ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে জীবাণুনাশক ছিটানোর পাশাপাশি কর্মহীন, খেটে খাওয়া মানুষের জন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন মানবিক এই নেতা। 

এছাড়া প্রথম ধাপে পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে   এ পর্যন্ত ৩০০ পরিবারকে সেমাই, চিনিসহ ইফতার সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন।

২য় ধাপে আরো ১৫০ পরিবারকে সেমাই চিনি মুড়ি ও ১ টি সাবান পৌঁছে দেন।
৩য় ধাপে ঈদ সামগ্রী বিতারন করা হলো পলুয়া গ্রামে ১৫০ টি পরিবারের মাঝে
এ প্রসঙ্গে ওমর ফারুক ভাই বলেন করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য মানুষ কাজ করতে পারছে না তাই অসহায় গরিব দরিদ্রদের মানুষের পাশে থাকার জন্য ঈদ সামগ্রী রিতারণ করছি ছোট ভাই ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মোঃ সবুজ হোসেনর মাধ্যমে।
এ প্রসঙ্গে ছাত্রলীগ নেতা সবুজ বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার মানুষজনকে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করেছে। তাই অসহায় ও হতদরিদ্র মানুষ খাদ্য সংকটে দিন কাটাচ্ছে । তাদের কষ্ট কিছুটা লাঘবের জন্য আমার এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। দেশরত্ন শেখ হাসিনা বলেছেন সততাই শক্তি, মানবতাই মুক্তি।

তিনি আরও বলেন, মানুষ মানুষের জন্য। তাই একজন মানুষ হিসেবে অসহায়দের পাশে দাঁড়ানো আমার নৈতিক দ্বায়িত্ব বলে মনে করেছি। এভাবে আমার সামর্থ্য অনুযায়ী প্রতিদিন কিছু মানুষের পাশে দাড়াবো, ইনশাআল্লাহ । এ কার্যক্রম পুরো রমজান মাস জুড়েই অব্যাহত থাকবে।
সাথে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন ঘুবলীগ নেতা মোঃ সান্টু, রায়হান, নজরুল, হুচাইন ছাত্রলীগ নেতা পারভেজ, সুজন, ইনজামুল
জাতির এমন ক্লান্তীলগ্নে মানবতার উপস্থিতি সকল নেতা কর্মীদের মাঝে থাকা উচিত বলে মনে করেন তিনি। ছাত্রলীগের প্রতিটি কর্মী দেশের দুর্যোগকালীন মুহূর্তে প্রতিবারের ন্যায় এবারও এগিয়ে এসেছে, ভবিষ্যতেও থাকবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

টাঙ্গাইলের মধুপুরে কেটিভি বাংলার উদ্যোগে খাদ্য সহায়তা

টাঙ্গাইলের মধুপুরে কেটিভি বাংলার উদ্যোগে খাদ্য সহায়তা


মো: আ: হামিদ মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

বিশ্বের চোখে বাংলাদেশ„ সারা বিশ্বের মানুষের চোখে বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ, বাংলাদেশের ঐতিহ্য এবং বাংলার সংস্কৃতিকে তুলে ধরার মধ্যদিয়ে সারা বিশ্বের মানুষের মনিকোঠায় স্থান করে নিয়েছে কেটিভি বাংলা। মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের মানুষ আজ ঘর বন্ধি তাই- দেশের এই দূর্যোগময় মুহূর্তে  কর্মহীন ও হতদরিদ্র পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে কেটিভি বাংলার পক্ষ থেকে মধুপুর উপজেলা প্রতিনিধি- মোঃ বাবুল রানা। উক্ত ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে অংশ নেন এবং বক্তব্য রাখেন- প্রেসক্লাব মধুপুর এর সভাপতি মোঃ আঃ হামিদ, সহ-সভাপতি   মোঃ আকবর হোসেন। সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে- কেটিভি বাংলার মধুপুর উপজেলা প্রতিনিধি এবং প্রেসক্লাব মধুপুর এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ বাবুল রানা বলেন-এই বাংলাদেশকে বিশ্বের প্রতিটি মানুষের চোখে ভাসিয়ে তুলতে কেটিভি বাংলা বিভিন্ন প্রদক্ষেপ হাতে নিয়েছে আর তারই ধারাবাহিকতায় আমি কেটিভি বাংলার পক্ষ থেকে মধুপুর উপজেলা প্রশাসন এবং মধুপুর উপজেলা সমাজ সেবা কার্ষালয়ের সহায়তায় ৩০টি কর্মহীন হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণের মাধ্যমে কেটিভি বাংলাকে সারা বিশ্বের সাথে পরিচয় করে দেওয়ার জন্যই আজ আমার এই সামান্য প্রচেষ্ঠা।

মানবিকতার দৃষ্টান্ত উপস্থাপন জবি ছাত্রলীগ কর্মী কনিকের

মানবিকতার দৃষ্টান্ত উপস্থাপন জবি ছাত্রলীগ কর্মী কনিকের


জবি প্রতিনিধিঃ
করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে যখন লকডাউনে দেশ, কর্মহীন হয়ে বিপদগ্রস্ত মানুষ, তখন সেচ্ছাশ্রম দিয়ে মানবিকতার দৃষ্টান্ত উপস্থাপন করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগের কর্মী কনিক স্বপ্নীল।

সারাদেশে থাকা বিপদগ্রস্ত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সহায়তা কার্যক্রম 'করোনা মোকাবেলায় জবিয়ানের পাশে জবিয়ান' ফান্ডের অনত্যম সেচ্ছাসেবক কনিক স্বপ্নীল। 'করোনা মোকাবেলায় জবিয়ানের পাশে জবিয়ান' কার্যক্রম থেকে ৪৩ দিনে ৩৫৪ জবিয়ান শিক্ষার্থীকে উপহার হিসেবে পাঠানো হয়েছে ৪ লক্ষ ৮৫ হাজার টাকা।

এছাড়া কনিকের আরও একটি সাহসী কার্যক্রম, ঢাকায় মেসে আটকে থাকা জবি শিক্ষার্থীদের বাড়ি পৌছানো। দেশের অন্যতম অনাবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় হওয়ায় মেসে থাকতে হয় জবির অধিকাংশ শিক্ষার্থীকে। লকডাউনে মেসে আটকে পরা শিক্ষার্থীদের বগুড়া, জয়পুরহাট, নওগাঁ, সিলেট, যশোর, ঝিনাইদহ, ময়মনসিংহ,নেত্রকোনা, নাটোর, বরিশাল, খুলনা, সাতক্ষীরা, ফরিদপুর, পটুয়াখালী, রংপুর, পঞ্চগড়,জামালপুর, কুড়িগ্রাম, বরগুনা, কুষ্টিয়াতে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন তিনি।

এছাড়াও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন জায়গায় বিপদগ্রস্ত মানুষকে পৌঁছে দিয়েছেন ত্রাণ। 'করোনা মোকাবেলায় জবিয়ানের পাশে জবিয়ান' কর্মসূচীতে দেশের ৬৪ জেলার বিপদগ্রস্ত জবিয়ানদের সরকারি ত্রাণ নিশ্চিত করতে কাজ করেছেন তিনি।

এবিষয়ে কনিক বলেন, আমার প্রথম পরিচয় আমি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, তারপর আমি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কর্মী। তাই এই দূর্যোগকালীন মূহুর্তে বসে থাকার কোনো সুযোগ ছিলো না। সবচেয়ে চ্যালেঞ্জ ছিলো ঢাকায় আটকে থাকা শিক্ষার্থীদের বাড়ি পৌঁছানো, এই কাজে সহায়তা করতে এগিয়ে আসায় আমি কৃতজ্ঞতা জানায় আমার শ্রদ্ধেয় শিক্ষক প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল স্যার, আব্দুল্লাহ আল বাকি স্যার, আমাদের জবির সাবেক শিক্ষার্থী ও মোহাম্মদপুর পেট্রোল জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার জোতির্ময় সাহা অপু ভাই,মাগুরা জেলার সহকারী পুলিশ সুপার আবির শুভ্র ভাই ও ৫ম ব্যাচের মহাখালী জোনের দায়িত্বপ্রাপ্ত সার্জেন্ট মুজাহিদুল ইসলাম ভাইকে।

হারিয়ে যাচ্ছে মানবতা আর মনুষ্যত্ব

হারিয়ে যাচ্ছে মানবতা আর মনুষ্যত্ব


 লিটন পাঠান গণমাধ্যমকমীঃ

মানবতা আর মনুষ্যত্ব যখন হারাতে বসেছে দেশ থেকে তখন মানুষ মানুষের জন্য জীবন জীবনের জন্য ভূপেন হাজারিকার এই বিখ্যাত গানটি দিয়ে দেশবাসীকে স্মরণ করিয়ে দিতেই আমার আজকের এই লেখাটি ভূপেন হাজারিকার উপমহাদেশে বিস্তর প্রভাব সৃষ্টিকারী সেই সময়ের এই গানটি এখন আর কারোর মনে একটু সহানুভূতি জাগাতে পারেনি বর্তমান সমাজ এবং দেশ যখন আধুনিকতার ছোঁয়ায় ভাসছে তখন অন্যপ্রান্তে ডুবে 
যাচ্ছে মানুষের সভ্যতা শিষ্টাচার আর সৌজন্যবোধ সাথে হারিয়ে যাচ্ছে নৈতিকতা, মানবতা আর মনুষ্যত্ব সমাজে এখন নেই ছোট 

বড়র কোনো পার্থক্য নেই সম্মান স্নেহ আর মায়ামতা গুরুজনের প্রতিও নেই শ্রদ্ধা ভক্তি আর সৌজন্যবোধ বলা যায় শিষ্টাচারিতার স্থানটি প্রায় লোপ পেয়ে যাচ্ছে এই দেশ এবং এই সমাজ থেকে আর এর জন্য অনেকটাই দায়ী আমাদের মতো বড়রা কারণ আমদের ঘরে একটা শিশু জন্মের পর বেড়ে উঠার সময় সে সমাজে এবং পরিবারে যা-ই দেখবে তাই গ্রহণ করবে উদাহরণ স্বরূপ বলছি, আমার সন্তান খারাপ হচ্ছে মানে ভাবতে হবে এখানে আমার কিছু 
সমস্যা রয়েছে। আমি কাউকে গালি দিলে আমার সন্তান সেটা 

কেনো শিখবে না তাই বড়রা ঠিক হলে ছোটরা অনেকটাই পরিবর্তনের দিকে আসবে। যেমন স্কুল-কলেজে শিক্ষকরা ক্লাসে প্রবেশ করলে দাঁড়িয়ে যাওয়াটা নিয়ম মনে করেই 
ছাত্ররা দাঁড়ায়। বাস্তবে সম্মান, শ্রদ্ধা এবং ভক্তি করে দাঁড়ানোর মানসিকতা ছাত্রদের ভেতর জাগ্রত নেই কারণ এই ধরনের 

শিক্ষা তারা পায় না আর শিক্ষাটা যে শুধু পরিবার থেকেই আসবে তা নয় সেই শিক্ষা আসতে পারে সমাজ থেকে স্কুল থেকে বড় ভাই থেকে বন্ধু থেকে কর্মস্থল থেকে, কিংবা কোনো সংগঠন থেকে কিন্তু বাস্তবে সমাজ পরিবার স্কুল কলেজ। বন্ধু-বান্ধব বড়ভাই কিংবা কোনো সংগঠনের কোথাও এই শিক্ষা নেই তাইতো এখন আর বড় ছোট কোনো পার্থক্য সমাজে নেই। এখন ছোটরাও বড়দের উপর আঘাত করতে চিন্তা করে না যার ভেতর শিষ্টাচার সৌজন্যবোধের অভাব থাকবে সেতো বড়দের আঘাত করবেই আর এই অভাব থাকার দায়টা বড়দেরকেই নিতে হবে। আজকাল বড়রাই 

ছোটদের এই শিষ্টাচার, নৈতিকতা এবং ভদ্রতা থেকে দূরে রাখছে তারাই ছোটদের নিয়ে কুকর্ম আর অন্যায় পথে হাটছে আর এ থেকে ছোটরা আর কি শিখবে। আপনি যদি আপনার বড়কে সম্মান না দেন তাহলে আপনাকে আপনার ছোটজন কীভাবে সম্মান দিবে আর আপনিইবা সেই সম্মান কীভাবে আশা করবেন তাই এখন থেকেই আপনার আমার সচেতন হতে হবে আমাদেই যার যার অবস্থান থেকে মানবিকতা 

নৈতিকতা নম্রতা ভদ্রতা শিষ্টাচারিতা সৌজন্যতা এবং ভালো ব্যবহার করতে হবে তবেই অন্যজন আমাদের কাছ থেকে তা দেখে শিখবে আমি অন্যজনের সাথে ভালো ব্যবহার করলে তার বিনিময়ে আমিও ভালো ব্যবহার পাবো তাই আগে নিজে পরিবর্তন এবং সচেতন হই, তারপর অন্যজনকে সচেতন করার কথা ভাবি। কারণ আমি যা করি তা অন্যজনকে কীভাবে না করবো। আমি নিজেই যদি অন্যায় কাজ করি আর মানুষকে বড় বড় লেকচার দিয়ে বলি তোমরা অন্যায় কাজ করিও না সেটাতো হতে পারে না। আমি কেমন সেটা মুখ দিয়ে 

প্রমাণ না করে কাজে প্রমাণ করাটাই আসল প্রমাণ। তাই আসুন আমরা প্রত্যেকে যার যার অবস্থান থেকে পরিবর্তন হই, দেখবেন একদিন দেশ হয়ে উঠবে ভালোবাসায় ভরপুর। সকলের ভেতর থাকবে শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা। তাই আসুন এখন থেকেই নিজেদের ভেতর সেই মানসিকতা তৈরি করি ছোটদের।

স্নেহ আর বড়দের সম্মান দিয়ে আগে নিজেরা নিজেদের ঠিক করি। তখন আমার কাছ থেকে বড়. ছোট উভয়জন শিক্ষা পাবে। পরিশেষে বলতে চাই, মুখে নয় কাজেই দেখাতে হবে সচেতনতা আর পরিবর্তনের ভাষা তা না হলে আমাদের মানবতা আর মনুষ্যত্ব একদিন অমানবতার পদতলে লুটাবে।

লেখক-গণমাধ্যমকমী
  (মোঃ লিটন পাঠান)

যুবলীগ নেতা রিয়াজুল ইসলাম জুয়েলের ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়

যুবলীগ নেতা রিয়াজুল ইসলাম জুয়েলের ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়


মিঠুন কুমার রাজ,
পিরোজপুর জেলা প্রতিনিধি।

ইন্দরকানী উপজেলা যুবলীগ এর পক্ষ থেকে ইন্দরকানী উপজেলা বাসী কে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন রিয়াজুল ইসলাম জুয়েল।

ইন্দুরকানী উপজেলাসহ দেশবাসীকে ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন, ইন্দুরকানী উপজেলা যুবলীগের ক্রীড়া সম্পাদক  ও ১ নং পাড়েরহাট ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক রিয়াজুল ইসলাম জুয়েল।

যুবলীগের এই নেতা বলেন, বিগত ঈদের মতো ২০২০ইং সালের আসন্ন ঈদুল ফিতর (রোজার ঈদ) এর আনন্দ তেমন ভাবে উপভোগ করতে পারবে না দেশবাসী।

কেন উপভোগ করতে পারবেনা তা আপনারা সবাই জানেন। করোনা ভাইরাসের কারনে আমাদের মাঝে মহাবিপর্যয় এসেছে আমরা জানি।

কোভিড-১৯ এর মহামারিতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের প্রায় ২০০টি দেশের কয়েক লাখ মানুষ মৃত্যুবরণ করেছেন।

পরিস্থিতি যাইহোক জীবনযাত্রা ও সময়তো আর থেমে থাকে না, আমাদের সবাইকে পবিত্র রমজান মাসে আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে সবার কল‍্যাণে দোয়া চাইতে হবে। আল্লাহ যেন আমাদের সবাইকে ক্ষমা করে হেফাজত করেন, আমিন।


সেই সাথে  সর্বস্তর মানুষ কে আমার ভালোবাসা সম্মান, বড়দের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে দেশবাসী সবাই কে ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি, ঈদ মোবারক।

রিয়াজুল ইসলাম জুয়েল  বলেন, আমরা দূর থেকেও ঈদের আনন্দ ও শুভেচ্ছা বিনিময় করতে পারি, বর্তমান করোনা পরিস্থিতি কেমন আমরা সবাই অবগত আছি, আসুন সবাই শারীরিক, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলি। সেই সাথে আবার সকলের সুস্বাস্থ্য কামনা করছি, আবারও সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা” ঈদ মোবারক।

দৌলতখানে সৈয়দপুর ৫নং ইউনিটে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের সতর্কতা মূলক সিপিপির প্রচারনা

দৌলতখানে সৈয়দপুর ৫নং ইউনিটে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের সতর্কতা মূলক সিপিপির প্রচারনা


স্টাফ রিপোর্টারঃ মোঃ আওলাদ হোসেন ভোলা,দৌলতখান।


বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় 'আম্ফান' অতি প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে সুপার সাইক্লোনে পরিণত হয়েছে। যার ফলে প্রাক বর্ষা মৌসুমে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া এ শতাব্দীর প্রথম সুপার সাইক্লোনের জায়গা দখল করে নিল আম্ফান।

ঘূর্ণিঝড় 'আম্ফান'-এর কেন্দ্রে বাতাসের গতিবেগ উঠে যাচ্ছে ঘন্টায় ২৬৫ কিলোমিটার পর্যন্ত। মূলত, বঙ্গোপসাগরে কোনো ঝড়ের কেন্দ্রে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ২২০ কিলোমিটারের ওপরে উঠে গেলে তাকে সুপার সাইক্লোন বলা হয়।


 
ভারতের আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, এটি পশ্চিমবঙ্গের দীঘা এবং বাংলাদেশের হাতিয়া দ্বীপের মাঝামাঝি কোনো স্থান দিয়ে উপকূল অতিক্রম করবে বুধবার (২০ মে) সন্ধ্যা নাগাদ।

বর্তমানে ঝড়টির যে অভিমুখ রয়েছে তা বাংলাদেশের ময়মনসিংহ-কুড়িগ্রামের ওপর দিয়ে সীমান্তের ওপারে আসাম পর্যন্ত নির্দেশ করছে। তবে দেশের অভ্যন্তরে এটি তাণ্ডব না চালালেও বজ্রসহ ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণের আশঙ্কা করা হয়েছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের  ইতোমধ্যে সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, ভোলা, পটুয়াখালি, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালি ও ফেনী সমুদ্র বন্দরকে ৭নম্বর এবং চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্র বন্ধরকে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। 
তারই পূর্ব সতর্কতা মূলক উপকূলীয় এলাকাতে আজ সোমবার সিপিপির স্বেচ্ছাসেবক কর্মীগন ভোলা জেলার ,দৌলতখান উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৫নং ইউনিটে মাইকিং সহ জনসচেতনতা মূলক পরামর্শ প্রদান করেন। প্রচারনায় অংশগ্রহণ করেছেন সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৫নং ইউনিটের স্বেচ্ছাসেবক  মোঃ সোহেল, মোঃআজাদ হোসেন,মোঃ মোতাহার সহ অনেকে।

হবিগঞ্জে দোকান পাট বন্ধের নির্দেশ

হবিগঞ্জে দোকান পাট বন্ধের নির্দেশ


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

স্বাস্থ্যবিধি না মানা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখায় হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে সকল দোকানপাট বন্ধের নির্দেশনা দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমি আক্তার
শায়েস্তাগঞ্জের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করে উপজেলা প্রশাসন এক পরিপত্র জারি করে আজ মঙ্গলবার (১৯-মে) থেকে(৩০মে) পর্যন্ত সব ধরনের শপিং-মল ও দোকানপাট বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন।

তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় কাঁচামালের বাজার দুপুর ২ টা পর্যন্ত সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে উন্মুক্ত স্থানে বসতে পারবে বলে জানানো হয় একই সাথে রোজাদারদের কথা বিবেচনা করে জেলা প্রশাসনের অনুমোদিত হোটেল রেস্তোরা গুলো দুপুর ২ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত খোলা রাখতে পারবে। আর জরুরি সেবা-দানকারী ফার্মেসি ও পণ্য-পরিবহনকারী যানবাহন এ বন্ধের আওতাভুক্ত থাকবে।

শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমি আক্তার বলেন, ব্যবসায়ী ও মার্কেটে আসা লোকজন বিন্দুমাত্রও স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখছেন না। এতে করে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে। এখন পর্যন্ত উপজেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কোন রোগী পাওয়া যায়নি। এ পর্যন্ত ১৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে তবে কারও পজিটিভ আসেনি। তাই যাতে নতুন করে আর কেউ আক্রান্ত না হয় তাই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এর পূর্বে শায়েস্তাগঞ্জ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি ও দাউনগর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ যৌথভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন দোকানপাট বন্ধ রাখার। তবে এ সিদ্ধান্ত না মেনে বিশেষ করে কাপড় কসমেটিকস্ ও জুতার দোকান গুলি খোলা রাখে। এতে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব না মেনে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় ছিল।

হবিগঞ্জে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচি চাল জব্দ ব্যবসায়ীর ১৫ দিনের জেল

হবিগঞ্জে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচি চাল জব্দ ব্যবসায়ীর ১৫ দিনের জেল

লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি  

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার জগদিশপুর তেমুনিয়ায় গোডাউনে সরকারী খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল রাখার দায়ে ভ্রাম্যমান আদালত মনোরঞ্জন সরকার নামে এক ব্যবসায়ী কে ১৫ দিনের কারাদন্ড দিয়েছে। সরকারী ৪৫০ কেজি চাল জব্দ করা হয়েছে।

সোমবার (১৮ মে) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসনূভা নাশতারান মাধবপুর উপজেলার জগদিশপুর পুরাতন তেমুনিয়া মনোরঞ্জন সরকারের ব্যবসা প্রতিষ্টান বিজয় সেন্টারের গোডাউনে অভিযান চালিয়ে সরকারী সীল মোহরকৃত বস্তায় ৪৫০ কেজি চাল জব্দ করে চাল গুলো ১০ টাকা কেজি দরে খাদ্যবান্ধব কর্মসুচির যা কার্ডধারীদের কাছে বিতরণ যোগ্য। মনোরঞ্জন কোন নিয়োগ প্রাপ্ত ডিলার নন।

পরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট তাসনুভা নাসতারান ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে সরকারী চাল মজুদ রাখার দায়ে গোদামের মালিক মনোরঞ্জন কে ১৫ দিনের কারাদন্ড প্রদান করেন। মনোরঞ্জন বর্তমানে থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। এদিকে ইউএনও জগদীশপুর ইউনিয়নের ভিজিডির কার্ড ধারিদের চাল পেয়েছেন কি না তা খতিয়ে দেখছেন।

উপজেলা খাদ্য অফিস সুত্রে জানা যায় জগদিশপুর ইউনিয়নে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজিতে চাল বিক্রর জন্য এনাম খান ও নাছির খান নামে দুজন ডিলার রয়েছে। কার্ডধারী রয়েছে ১২ শ লোকের অধিক দুজন ডিলার খাদ্য গোদাম থেকে চাল উত্তোলন করে গত রোববার থেকে কার্ডধারীদের মাঝে বিক্রি শুরু করে।

ডিলার দের সাথে জানতে চাওয়া হলে তারা জানান আমরা নিয়ম অনুযায়ী সচ্ছতার সাথে চাল কার্ডদারীদের মাঝে বিতরণ করছি প্রশাসনের একটি সুত্রে জানা গেছে কার্ডধারী দের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে তারা চাল ক্রয় করেছে কি না চাল গুলো কিভাবে মনোরঞ্জন গোডাউনে গেল কোথায় থেকে সরকারী চাল পেল এ বিষয়ে তদন্ত করার জন্য একটি কমিটি গঠন হতে পারে।

মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল হোসেন জানান, সাজার আদেশ প্রাপ্ত মনোরঞ্জন সরকার এখন থানায় আছে মঙ্গলবার সকালে তাকে হবিগঞ্জ কারাগারে পাঠানো হবে।

অতীতের যেসব রেকর্ড ভেঙ্গে-চূড়ে ধেয়ে আসছে আম্ফান, কঠিন হুশিয়ারি আবহাওয়া অফিসের

অতীতের যেসব রেকর্ড ভেঙ্গে-চূড়ে ধেয়ে আসছে আম্ফান, কঠিন হুশিয়ারি আবহাওয়া অফিসের

ছবি : সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্ক:
শক্তিশালী থেকে অতি শক্তিশালী হচ্ছে ঘূর্ণিঝড় আমপান। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আমপানের শক্তি কয়েকগুণ বাড়বে। আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, আমপান ‘সুপার সাইক্লোন স্টর্ম’-এর চেহারা নেবে। এই অতি শক্তিশালী ঘূ্র্ণিঝড়ের ঘূর্ণনের গতিবেগ হতে পারে সর্বোচ্চ ২১০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা।

বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, সোমবার সন্ধ্যায় পশ্চিম মধ্যবঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছিল। এটি বিকাল ৩টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৯৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল।

সিএনএন বলেছে, আমফান ইতোমধ্যে আটলান্টিক অঞ্চলের ৪ ক্যাটাগরির হারিকেনের গতিসম্পন্ন হয়ে গেছে।

আবহাওয়াবিদেরা বলছেন, ঘুর্ণিঝড় আমফান উপকূলে উঠার পর গতি দ্রুত কমে গেলেও যা গতিবেগ থাকবে তা সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলো দুমড়ে-মুচরে দিয়ে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট হবে। উপকূলে উঠার আগে ও পরে কমপক্ষে ৩০ ফুট (৯মিটার) উচ্চতার জলোচ্ছাসে স্থলভাগের বিশাল অংশ পানিতে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ছবি : সংগৃহীত

১৯৯১ সালের পরে বঙ্গোপাসাগরে এত শক্তিশালী ঘুর্ণিঝড় আর সৃষ্টি হয়নি। সিডর ও আইলার গতিও এতো ছিল না। সিডরের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ২২০ কিলোমিটার।

ভারতের বেসরকারি আবহাওয়া পূর্বাভাস সংস্থা স্কাইমেটের প্রধান মহেশ পালাওয়াট জানাচ্ছেন, "এই শতাব্দীতে প্রাক-মনসুন পর্বে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া এটাই কিন্তু প্রথম সুপার সাইক্লোন।"

"এর আগে ২০০৭ সালের জুনে আরব সাগরে সুপার সাইক্লোন 'গোনু' তৈরি হয়েছিল – যেটা পরে ওমানের দিকে সরে যায়।"

"আমপান এর মধ্যেই ঘন্টায় ১৫০ কিলোমিটারেরও বেশি গতিবেগসম্পন্ন ঝড়ো বাতাস সঙ্গে 'প্যাক' করে নিয়েছে। মাত্র ২৪ ঘন্টার মধ্যে এটা একটা ঘূর্ণিঝড় থেকে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে, সেটাও একটা রেকর্ড।"

উপকূলের কাছাকাছি এলে এই ঘূর্ণিঝড়ের তীব্রতা সামান্য কমবে, তবে তার পরেও এর বিধ্বংসী ক্ষমতাকে খাটো করে দেখার কোনও সুযোগ নেই – জানাচ্ছেন তিনি।

তিনি বলছিলেন, "স্থলভূমি থেকে শুকনো বাতাস এসে সিস্টেমটাকে কিছুটা দুর্বল করে দেয় – এই আমপানের ক্ষেত্রেও সেটাই ঘটবে। কিন্তু তার পরেও এটা একটা প্রচন্ড সাঙ্ঘাতিক ঘূর্ণিঝড় – যার তান্ডব আর ক্ষয়ক্ষতি সাধনের ক্ষমতা মারাত্মক। ফলে পুরো উপকূলীয় এলাকা জুড়েই মানুষকে সাবধান থাকতে হবে।" বিবিসি


জবি প্রেসক্লাব জরিপ, অনলাইন ক্লাসে ৯০ শতাংশ শিক্ষার্থীর 'না'

জবি প্রেসক্লাব জরিপ, অনলাইন ক্লাসে ৯০ শতাংশ শিক্ষার্থীর 'না'


 জবি প্রতিনিধিঃ

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে বন্ধ দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকতে পারে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এমন পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয় দেশের সকল সরকারি এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে অনলাইনে ক্লাশ নেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো শুরু করেছে অনলাইন ক্লাসের প্রক্রিয়া। কথা উঠছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে সেশনজট কমিয়ে আনতে অনলাইন ক্লাসের যৌক্তিকতা নিয়েও।


সবমিলিয়ে অনলাইনে ক্লাস করার ব্যাপারে কী ভাবছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীরা তা জানতে অনলাইন জরিপের আয়োজন করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাব। জরিপের ফলাফল অনুযায়ী প্রায় ৯০ শতাংশ শিক্ষার্থী অনলাইনে ক্লাসে অনীহা প্রকাশ করেছেন।


রোববার (১৭মে) রাত ৮.৩০ থেকে সোমবার (১৮মে) দুপুর ৩.৩০ পর্যন্ত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ফেসবুক গ্রুপ থেকে চালানো অনলাইন জরিপে অংশ নেন ১,২২৬ জন শিক্ষার্থী। এরমধ্যে অনলাইনে ক্লাস করাতে অনীহা প্রকাশ করেন ১,০৯৭জন শিক্ষার্থী। যা জরিপে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের ৮৯.৪৮ শতাংশ। 


এছাড়াও অনলাইনে ক্লাসের পক্ষে মতামত দেন ১১৩ জন শিক্ষার্থী। যা জরিপে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের ৯.২২ শতাংশ। কোনো মতামত নেই এমন শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৬ জন। যা জরিপে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের ১.৩ শতাংশ।


শিক্ষার্থীরা বলছেন, অধিকাংশ শিক্ষার্থী এখন  গ্রামে অবস্থান করছেন। গ্রামে পর্যাপ্ত ইন্টারনেট পরিসেবার যেমন অভাব তেমনি সব শিক্ষার্থীর অনলাইনে ক্লাস করার জন্য ইন্টারনেটে পরিসেবা ক্রয়ের আর্থিক সামর্থ্যও নেই। 


বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী ওহিদুজ্জামান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীর যদি অনলাইন সুবিধা না থাকে তাহলেতো ক্লাস নেওয়া সম্ভব না। যদি ধরে নিই,  ৮০ শতাংশ শিক্ষার্থীর অনলাইনে ক্লাস করারা সুযোগ আছে, তাহলে বাকি ২০ শতাংশ শিক্ষার্থীতো বাদ যাচ্ছেই।

হবিগঞ্জে চালককে হত্যা করে ট্রাক ছিনতাই

হবিগঞ্জে চালককে হত্যা করে ট্রাক ছিনতাই


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের সাতছড়ির বনে চালককে হত্যা করে ট্রাক ছিনতাই করেছে দুর্বৃত্তরা পুলিশ ঘটনার ৫ দিনের মাথায় হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে এ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে দুই দুর্বৃত্তকে আজ সোমবার (১৮-মে) বিকেলে ট্রাক চালকের মরদেহ উদ্ধার করা হয় নিহত ট্রাক চালক সাগর সরকার হবিগঞ্জ শহরের নোয়াহাটি এলাকার বাসিন্দা প্রদীপ সরকারের পুত্র পুলিশ সূূূত্র জানায় সাগর জনৈক কবির মিয়ার পিকআপ ভ্যান।

চালাতো একই মালিকের অপর একটি পিকআপ ভ্যান চালাতো বাবুল মিয়া তার পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ১৩ মে তার পরিচিত আলাউদ্দিনসহ একটি চক্র গাড়িটি ভাড়ার নামে সাগরকে নিয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় যায় সেখান থেকে মাধবপুর উপজেলায় যাওয়ার কথা বলে রওয়ানা হয় পথে চুনারুঘাট উপজেলার সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের পাশে গহীন বনে নিয়ে চালক সাগরকে হত্যার পর লাশ ফেলে রাখে গাড়িটি বিক্রির উদ্দেশ্যে মাধবপুর উপজেলার বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তবর্তী 

মনতলা এলাকায় নিয়ে যায়
এ ঘটনায় নিখোঁজ সাগরের বাবা প্রদীপ সরকার হবিগঞ্জ সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন এর প্রেক্ষিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি মোঃ মাসুক আলী ঘটনার তদন্ত করেন পুলিশ প্রথমে সন্দেহ করে গাড়িটি হয়তো চালক সাগরই নিয়ে পালিয়েছে। পরে প্রযুক্তি ব্যবহার করে অপর পিকআপ চালক শহরের যশেরআব্দা এলাকার বাসিন্দা তাজু মিয়ার ছেলে বাবুল মিয়াকে আটক করে।

  বাবুলের দেয়া তথ্য মতে শায়েস্তাগঞ্জের আব্দুল কাদিরের ছেলে আলাউদ্দিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ তারা ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে হত্যার আদ্যোপান্ত বর্ণনা করে তাদের দেয়া তথ্যে আজ সোমবার বিকেলে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের গহিন বন থেকে চালক সাগরের মরদেহ উদ্ধার করে।

মনতলা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে ছিনতাই করা পিকআপ ভ্যানটিও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রবিউল ইসলাম জানান ঘটনার সাথে মোট ৪ জন সম্পৃক্ত। তাদের একে অপরের সাথে কারাগারে পরিচয় হয় তাদের অপর দুই সহযোগিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

পালিয়ে আসা করোনা রোগী ক্লিনিক থেকে উদ্ধার

পালিয়ে আসা করোনা রোগী ক্লিনিক থেকে উদ্ধার


মোরশেদ আলম
যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি। 

যশোর থেকে পালিয়ে আসা করোনা রোগী কেশবপুর উপজেলা শহরের মহাকবি মাইকেল ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে উদ্ধার করেছে উপজেলা প্রশাসন। এ কারণে ঐ ক্লিনিকটি লকডাউন করাসহ ক্লিনিকে ভর্তি রোগীদেরকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। ওই রোগী করোনা আক্রান্তের খবর গোপন করে ঐ ক্লিনিকে ভর্তি হয়।

জানা গেছে, করোনার উপসর্গ নিয়ে উপজেলার বাউশলা গ্রামের এক মেয়ে (১৬) যশোর মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়। সেখানে করোনা পরীক্ষা করলে তার শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। রোববার এ খবর জানতে পেরে সে পালিয়ে কেশবপুর শহরের মহাকবি মাইকেল ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি হয়। করোনায় আক্রান্ত ওই রোগীকে প্রশাসনের লোকজন খুঁজে ফিরছিলো। গোপন সংবাদ পেয়ে রোববার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুসরাত জাহান পুলিশ ফোর্স নিয়ে ওই ক্লিনিকে গিয়ে করোনা রোগীকে উদ্ধার করেন । এবং ক্লিনিকে লাল পতাকা টাঙিয়ে লকডাউন করে দেন। এছাড়া ক্লিনিকে ভর্তি সকল রোগীদের বাড়িতে পাঠিয়ে ১৪ দিনের জন্য হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়।

ক্লিনিক মালিক মাহামুদুল হাসান টুলু দাবি করেছেন, ঐ রোগী করোনায় আক্রান্তের খবর গোপন করে রোববার (১৭ মে) ক্লিনিকে ভর্তি হয়। ভর্তির খবর পেয়ে প্রশাসনের লোকজন এসে ঐ রোগীকে নিয়ে যায় এবং ক্লিনিক লকডাউন ঘোষণা করে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডাক্তার শেখ আলমগীর হোসেন বলেন, করোনা আক্রান্ত ওই রোগী যশোর হাসপাতাল থেকে পালিয়ে এসে কেশবপুরের ওই ক্লিনিকে ভর্তি হয়েছিল । তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজের আইসোলেশনে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূসরাত জাহান বলেন, করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পেয়ে ওই রোগী যশোর থেকে পালিয়ে কেশবপুরের একটি ক্লিনিকে তথ্য গোপন করে ভর্তি হয়। তাকে উদ্ধার করে ওই ক্লিনিক লকডাউন করা হয়েছে।