এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের সময় পরিবর্তন

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের সময় পরিবর্তন



নিউজ ডেস্কঃ এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার  ফলাফল প্রকাশের সময় পরিবর্তন করা  হয়েছে। পূর্বের ঘোষণা অনুযায়ী আগামী রোববার (৩১ মে) বেলা ১২টার পরিবর্তে ফলাফল টি ১ ঘণ্টা এগিয়ে বেলা ১১টার সময় প্রকাশক  করা হবে। তবে এর  আগে সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফলাফল ঘোষণা করবেন। অপরদিকে সকাল ১১টায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ফলাফলের বিস্তারিত প্রকাশ করবেন। শনিবার (৩০ মে) বিকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের কর্তৃক প্রেরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিটিভি সম্পূর্ণ বক্তব্য ধারণ করবে। নিউজ ও ফুটেজ সকল ইলেক্টনিক মিডিয়ায় প্রেরণ করা হবে। ফুটেজ ও প্রাসঙ্গিক ডকুমেন্টস ইমেইল, মেজেঞ্জার ও উইট্রান্সফারে ও প্রেরণ করা হবে। পাশাপাশি ফেসবুকে লাইভ করা হবে। কমেন্ট
অপশনে গিয়ে যে কেউ প্রশ্ন করতে পারবেন। বক্তব্য শেষে জবাব দেয়া হবে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনা মহামারির কারণে স্বাস্থ্য ঝুঁকি বিবেচনায় গণমাধ্যম কর্মীদেরকে ব্রিফিং এর স্থানে না আসার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হল।


লিচুর ঝুড়িতে গাঁজা!

লিচুর ঝুড়িতে গাঁজা!





নিউজ ডেস্কঃ

 

লিচুর খাচায় গাঁজা নিয়ে যাওয়ার সময় চৌগাছা থানা পুলিশ শনিবার বিকেলে ৩ কেজি গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে। আটক মাদক ব্যবসায়ী যশোর সদর উপজেলার শেখহাটি গ্রামের মৃত লালু গাজীর ছেলে মিন্টু (৩৫)।

থানাসূত্রে জানাগেছে, অভিনব কৌশলে লিচুর ঝুড়ির ভিতর গাঁজা নিয়ে যাচ্ছিল মাদক ব্যবসায়ী মিন্টু। গোপন খবর পেয়ে চৌগাছা থানার এসআই শাহিন উপজেলার বর্ণী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করেন।  এসময় তার কাছে থাকা ঝুড়ি খাঁচা থেকে ৩ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

চৌগাছা থানার ওসি রিফাত খান রাজিব আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জনমনে করোনা আতঙ্ক ছড়াতে পারেনি, অপেক্ষায় আছে সরকারি সিদ্ধান্তের

জনমনে করোনা আতঙ্ক ছড়াতে পারেনি, অপেক্ষায় আছে সরকারি সিদ্ধান্তের




কুমিল্লা উত্তর জেলা প্রতিনিধি, আলমগীর হোসাইনঃ

বিশ্বজুড়ে করোনা পরিস্থিতি যেনো থমকে রয়েছে গোটা বিশ্ব। প্রতিক্ষায় আছে কবে আসবে কাঙ্ক্ষিত ভ্যাক্সিন। সারা বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ষাট লক্ষ পঞ্চাশ হাজারেরও বেশি ছাড়িয়েছে, মৃত্যু প্রায় তিন লক্ষ সাতষট্টি হাজারের মতো, করোনা মোকাবিলায় এই পর্যন্ত আরোগ্যলাভ করেছেন ছাব্বিশ লাখ ছিয়াশি হাজারের উপরে যা মোট আক্রান্তের ৪৪%। 

বাংলাদেশে প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্তকারি শনাক্ত হয় ৮ই মার্চ, এর পর থেকে ক্রমান্বয়ে বাড়তেই থাকে, বর্তমানে বাংলাদেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৪,৬০৮ জন। এই পর্যন্ত ৯,৩৭৫ জন সেরে উঠলেও মৃত্যু স্রুত যেনো থামছেই না। 

এমতাবস্থায় জনমনে নেই আতঙ্কের ছাপ, সরকারি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার অপেক্ষায় যেনো দিশেহারা সাধারণ জনগন। মহামারী করোনা ভাইরাসের সামান্যতম ভয়ভীতি কাজ করছে না তাদের মনে।

এদিকে সরকারী নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলেই স্থানীয় প্রশাসনিক ক্ষমতার বলে কোথাও কোথাও মানতে হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি। সরকারি পরামর্শ সবাইকে মাস্ক পরিধান করে, যথাযথ নিরাপত্তা জোরদার করে বাইরে বের হতে হবে, এদিকে হাট বাজারগুলোতে চলছে ভিন্ন কিছু।

আজ সকালে কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলা বাংগরা বাজার থানার একটি গ্রামের দৈনন্দিন বাজারের একটি স্থীর চিত্রে স্পষ্ট ফুটে উঠেছে, করোনা ভাইরাসের মহামারিতে কতটা ভীতসন্ত্রস্ত  জনমনে।

করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে আসতে হবে সবাইকে, নিজ নিজ দায়ীত্ব নিয়ে রোখতে হবে। বাড়াতে হবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। এ জন্য দেশের সবাইজে এক যোগে কাজ করতে হবে বলে জানিয়েছেন দেশের দায়ীত্বশীলেরা।

শিবগঞ্জে গাজাঁ খেতে নিষেধ করায় বাড়িতে হামলা!

শিবগঞ্জে গাজাঁ খেতে নিষেধ করায় বাড়িতে হামলা!




শামিম উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ পৌরএলাকায় গাঁজা খেতে নিষেধ করায় নিষেধকারীর বাড়িতে হামলা করেছে নেশাখোররা।

ঘটনাটি শনিবার দুপুরে পৌর এলাকার ৩নং ওয়ার্ডের ছোটচক মাষ্টার পাড়ায় ঘটেছে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীদের পক্ষ থেকে শিবগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে,মাষ্টারপাড়া এলাকায় একটি ফাঁকা জায়গায় গাঁজা দিয়ে নেশা করছিল একদল যুবক।মাঝে মধ্য ওখানে নেশার আড্ডা হওয়ায় ভুক্তভোগীরা নিষেধ করলেও বিষয়টি তারা আমলে নিতনা।প্রেক্ষিতে শনিবার দুপুরে নেশা করার সময় রাস্তা দিয়ে পুলিশের একটি দল টহল দেয়ার সময় রবিউল ইসলামের ছেলে জনি পু্লিশের কাছে নেশার আড্ডার বিষয়টি জানিয়ে দিলে পুলিশ সেখানে ধাওয়া করে। এ সময় নেশাখোরদের দলটি পালিয়ে গেলে পরে তারা অভিযোগ কারীর নাম জানতে পেরে তার বাড়িতে হামলা চালায়।

অভিযোগে আরও বলা হয় হামলার ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ৫০-৭০হাজার টাকা ।
এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার ওসি শামসুল সিলাম শাহ জানান, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

নওগাঁয় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত

নওগাঁয় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত




  মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর মহাদেবপুরে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত হয়েছে। শনিবার নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের মহাদেবপুর উপজেলার নওহাটামোড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, মহাদেবপুর উপজেলার রনাইল গ্রামের মজনু হোসেন এবং  নিয়ামতপুর উপজেলার তালপকুরিয়া গ্রামের ভুট্টু আলী। মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত  (ওসি)  মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, এদিন রনাইল গ্রাম থেকে মজনু তার শ্বশুর বাড়ি তালপকুরিয়ায় মোটরসাইকেল যোগে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে বিপরিত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক নওহাটা মোড় এলাকায় মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেলের থাকা তিন আরোহীর মধ্যে ঘটনাস্থলেই দুইজন মারা যান। এ ঘটনায় এক শিশু আহত হয়। সংবাদ পেয়ে শিশুকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতদের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ওসি আরো জানান, ঘটনারপর ট্রাকটি পালিয়ে যাওয়ায় আটক করা সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরে করা হয়েছে।

করোনায় অচলাবস্থার মধ্যে গ্রামে এসেছিলাম মাটি ও মানুষের সান্নিধ্য পেতে-এমপি ইসরাফিল আলম

করোনায় অচলাবস্থার মধ্যে গ্রামে এসেছিলাম মাটি ও মানুষের সান্নিধ্য পেতে-এমপি ইসরাফিল আলম




মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁ-০৬(আত্রাই
-রাণীনগর) এর স্থানীয় সংসদ সদস্য  ও নওগাঁ জেলা আওয়ামিলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইসরাফিল আলম এমপি বলেছেন- প্রায় ২ মাসের অধিক সময় পর স্হান পরিবর্তন করতে সকালবেলা যাত্রা শুরু।
পেছনে রয়ে গেল কত মন ,কত মানুষ আর কত স্মৃতিময় সময়। সামনে কে আছে,কি আছে জানিনা। শুধু জানি এই পথচলার গতি যে ক’দিন আছে, সে ক’দিন তো পেছনের স্মৃতিময় বোঝা কাঁধে নিয়ে সামনের দিকে এগুতেই হবে।
তিনি আরও বলেন- অনাগত দিনের যাত্রাপথের গন্তব্যস্হলগুলো  কল্যানময় হোক, মঙ্গলময় হোক, সত্য ও সুন্দরের হোক -সেই কামনার দ্বীপ শিখাটি অনির্বাণ রাখতে তাঁর আশ্রয় অবারিত থাক ইয়া রব।

নওগাঁর রাণীনগরে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের

নওগাঁর রাণীনগরে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের



মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর রাণীনগরে গভীর রাতে বাসায় ঢুকে ব্যবসায়ী রুঞ্জ মন্ডল (৪৫) কে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে ব্যবসায়ী রুঞ্জু মন্ডলের স্ত্রী দুলালী বিবি বাদী হয়ে রাণীনগর থানায় এই মামলা দায়ের করেন।
রাণীনগর থানার ওসি মো: জহুরুল হক জানান,লাশের ময়না তদন্ত শেষে শুক্রবার লাশ দাফন করা হয়েছে। এরপর রাতে রুঞ্জু মন্ডলের স্ত্রী দুলালী বিবি বাদী হয়ে একজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ব্যবসায়ী রুঞ্জু মন্ডল কেন, কি কারণে এমন নির্মম হত্যা কান্ডের শিকার হয়েছেন তা সার্বিকভাবে ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি বলেন, ঘটনা যেভাবেই ঘটুক আর যেই জরিত থাকুক না কেন খুব দ্রুততম সময়ের মধ্যে উদঘাটন করা হবে। তবে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের সার্থে আসামীর নাম ঠিকানা প্রকাশ করেননি এই কর্মকর্তা।উল্লেখ্য,বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার রাতোয়াল গ্রামের আলহাজ্ব শুকবর আলীর ছেলে রুঞ্জু মন্ডলের বাসার গোয়াল ঘরের টিনের চালা কেটে অভিনব কৌশলে পানির মটর চালু করে। মটর বন্ধ করতে রুঞ্জু মন্ডল বের হলে মূখোশধারী এক যুবক ধারালো অস্ত্র দিয়ে এ্যালোপাথারী ভাবে কুপিয়ে ক্ষত বিক্ষত করে। রাতেই তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নওগাঁ পরে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করালে ভোর রাতে মারা যান তিনি।

কেশবপুরে জিয়াউর রহমানের ৩৯ তম শাহাদাত বার্ষিকী পালন ও বৃক্ষ রোপণ

কেশবপুরে জিয়াউর রহমানের ৩৯ তম শাহাদাত বার্ষিকী পালন ও বৃক্ষ রোপণ




মোরশেদ আলম
 যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি। 

শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৩৯তম শাহাদত বার্ষিকীতে, বিএনপি'র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য, যশোর কেশবপুর উপজেলা বিএনপি'র সফল সভাপতি যশোর -৬ উপ-নির্বাচনের ধানের শীষের মনোনীত প্রার্থী  জননেতা জনাব আবুল হোসেন আজাদ ও কেশবপুর পৌর বিএনপি'র আহ্বায়ক শেখ শহিদুল ইসলাম শহিদের নির্দেশনায় কেশবপুর উপজেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা ও কালো পতাকা উত্তলন করেন, যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ৷

যুবদল নেতা মেহেদী হাসান জানান কেশবপুর বিএনপি'র দলীয় কার্যালয়ে চারিপাশে বৃক্ষ রোপন কর্মসূচী পালন করেন, যুবদলের নেতাকর্মী ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ৷

এর পরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া করা হয় ৷ 

দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও  সাবেক পৌর মেয়র আব্দুস সামাদ বিশ্বাস , কেশবপুর ৬ নম্বর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন আলা, ৩ নম্বর মজিদপুর ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ন কবির পলাশ, কেশবপুর উপজেলা যুবদলের সহ-সভাপতি আলমগীর সিদ্দিক,যুবদল নেতা আব্দুল হালিম অটল ৷

বৃক্ষ রোপন কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন যুবদল নেতা মেহেদী হাসান বিশ্বাস, যুবনেতা ইব্রাহীম বিশ্বাস, যুবনেতা কে এম আজিজ, আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রদলের ছাত্রনেতা আজিজুর রহমান আজিজ, ছাত্রনেতা মেহেদী হাসান হিমেল, মোস্তাফিজুর রহমান, সবুজ আরমান, মোঃ মনিরুজ্জামান মিলন, মোঃ আলাউদ্দিনসহ আরও বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন ৷

চিন্তা-দুশ্চিন্তা নিয়ে কিছু কথা

চিন্তা-দুশ্চিন্তা নিয়ে কিছু কথা




 লিটন পাঠান গণমাধ্যমকর্মীঃ

যে কোনো দুশ্চিন্তা ব্যক্তির, পারিপার্শ্বিকতার ওপর নির্ভর করে যেমন 
বর্তমানে করোনাভাইরাস সবার মনে কমবেশি উদ্বেগের সৃষ্টি করেছে উদ্বেগ যে 

কোনো সময় তৈরি হতে পারে এর উৎসও ভিন্ন হতে পারে উদ্বেগ মূলত ভয় বা 
আশঙ্কা যা মানসিক চাপের উৎপত্তিতে মুখ্য ভূমিকা পালন করে অতিরিক্ত 

মানসিক চাপ সুস্থ বা অসুস্থ শরীর বলে কথা নেই কারণ চাপ চাপই তবে শরীরের 
সুস্থতা নিশ্চিত করে কী পরিমাণ চাপ সহ্য করা সম্ভব এবং তা নির্ভর করে চাপের 

ধরনের ওপর। চাপের কারণ নির্ভর করে আশা বা প্রত্যাশার ওপর নিজের ওপর 
নিজের চাপের কারণ হলো প্রত্যাশা নিজে ছাড়া আশা বা প্রত্যাশার ওপর 

যারা চাপ সৃষ্টি করে তার মধ্যে রয়েছে যেমন বল্পুুব্দ-বান্ধবী বাবা মা পরিবার 
লেখাপড়া চাকরি সমাজ ইত্যাদি মানসিক চাপ বিষণ্ণতা ও দুশ্চিন্তা-এই শব্দগুলো 

আমাদের প্রতিদিনের সঙ্গী হয়ে দাঁড়িয়েছে ইচ্ছা থাকলেও আমরা এর 
থেকে মুক্তি পেতে পারছি না মানসিক চাপের সঙ্গে নতুন করে পরিচয় করানোর 

কিছু নেই প্রতিদিনের বিভিন্ন ঘটনা বা পরিস্থিতি যেমন কোনো জটিল সমস্যা 
চ্যালেঞ্জ অতিরিক্ত কাজ প্রত্যাশা ইত্যাদির ফলে আমাদের দেহ ও মনের 

ওপর যে চাপ পড়ে, তাকে আমরা স্ট্রেস বা মানসিক চাপ বলতে পারি অর্থাৎ 
দৈহিক মানসিক পারিবারিক সামাজিক বা পেশাগত চাপের কারণে আমাদের 

দৈনন্দিন জীবনে সৃষ্টি হয় এক অস্থিতিশীল অবস্থা যা পরবর্তীকালে হতে 
পারে শারীরিক ও মানসিক অসুস্থতার কারণ দীর্ঘকালীন মানসিক চাপ বয়ে 

আনে শারীরিক ও মানসিক সমস্যা যা মস্তিস্কে প্রভাব ফেলে পরিশেষে আমরা 
হয়ে যাই অসুস্থ বাংলাদেশে শিক্ষাজীবনের শুরুতে শিশুর ওপর চাপ 

পড়ছে বেশি বইয়ের চাপ সিলেবাসের চাপ পরীক্ষার চাপ সৃজনশীল শিক্ষার 
চাপ জিপিএর চাপ তারপরও কিন্তু সন্তুষ্ট নয় অনেকেই এখনকার ব্যস্ত জীবনে 

মানুষের মধ্যে উদ্বেগ বাড়ছে ব্যস্ততা আর উদ্বেগ মিলিয়ে মনের ওপর বেশ চাপ 
যাচ্ছে। যার ফলে মনে প্রশান্তি আনার সুযোগ মিলছে না প্রতিকূল পরিস্থিতির 

মধ্যে পড়লে শারীরিক ও মানসিক অবস্থার ওপর একধরনের প্রভাব পড়া 
স্বাভাবিক আর এভাবে বেড়ে উঠছে আমাদের নতুন প্রজন্ম শুধু বাংলাদেশের 

প্রজন্মের কথা নয় এটা গোটা বিশ্বের প্রজন্মেরই প্রতিচ্ছবি এখন যদি আমরা 
মনে করি এভাবে চলতে দেওয়া যাবে না তাহলে কী করণীয় রয়েছে আমাদের

প্রথমত আমাদের প্রত্যাশা সন্তানের ওপর যাতে মানসিক চাপ না সৃষ্টি করে সেদিকে 
খেয়াল রাখতে হবে হঠাৎ করে এমন একটি পরিবর্তন বাবা মায়ের জন্য এক 

নতুন চাপ সন্তানের খাবারের দিকে নজর দিতে হবে যে খাবারে পুষ্টি উপাদানগুলো 
রয়েছে যা স্নায়ুকে শীতল রাখতে সহায়তা করে সাময়িকভাবে হলেও তা কিছুটা 

মানসিক চাপ কমায় এ খাবারগুলো যেন বাসায় থাকে সে বিষয় লক্ষ্য রাখতে হবে 
শরীর সুস্থ রাখার জন্য খেলাধুলা ও শারীরিক অনুশীলন খুবই কার্যকর 

এগুলো মানসিক চাপ থেকে মুক্ত থাকতে সাহায্য করে এ কাজগুলো আনন্দ দেবে 
আর এ কারণে মানসিক চাপও কমে যাবে সময় পেলে হাঁটার চেষ্টা করুন 

মানসিক চাপ কমানোর অন্যতম একটি উপায় প্রকৃতির কাছাকাছি হাঁটলে 
সবচেয়ে বেশি উপকার পাওয়া যায় এটা পরীক্ষিত সক্রিয়ভাবে খেলাধুলা করা 

ঘাম ঝরানো বা কায়িক পরিশ্রম যে শুধু শরীরের উপকার করে তা নয় পরিশ্রমের 
ফলে শরীরের অন্তর্নিহিত মেদ ক্ষরিত হয়। লেখক, মোঃ লিটন পাঠান গণমাধ্যমকর্মী

কুয়েতে আজ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ১০০৮ জন, মৃত্যু ১১ জন

কুয়েতে আজ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত  ১০০৮ জন, মৃত্যু ১১ জন



দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুর কুয়েত প্রতিনিধিঃ
কুয়েতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য মতে, আজ করোনা ভাইরাসে আরো ১০০৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন বলে শনাক্ত করা হয়েছে।
এ পর্যন্ত কুয়েতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৬১৯২ জনে, চিকিৎসাধীন  ১৫৮৩১ জন, সুস্থতা লাভ করেছেন ১০১৫৬ জন ও বর্তমানে সংকটপূর্ণ অবস্থা ২০৬ জন।

আজ নতুন করে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।
এনিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ২০৬ জনের। 

গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত বিভিন্ন দেশের নাগরিক।
ভারতীয় নাগরিক -২২৯ জন
স্থানীয় নাগরিক- ২৮৭ জন
মিশরীয় নাগরিক - ১৭১জন

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বাংলাদেশী আজ নতুন করে আরো ১৩৩ জন সহ শনাক্ত মোট ২৮৮১ জনে দাঁড়িয়েছে ।
বাকিরা অন্যান্য দেশের।

৫ টি জেলায় আক্রান্তদের সংখ্যা।
ফারওয়ানিয়া - ৩২৪ জনে
আল-আহমদি - ২১৫ জন
হাওয়াল্লী - ১৬৩ জন
আল-জাহরা - ১৯৬ জন
রাজধানী কুয়েত সিটিতে  - ১১০ জন

আবাসিক এলাকায় গুলোতে আজ সর্বোচ্চ আক্রান্ত।
জিলিব আল-সুয়েখ -৮১ জন
আব্দালি - ৬৭ জন
ফারওয়ানিয়া - ৯২ জন
হাওয়াল্লী - ৬২ জন

এছাড়াও দেশটির তিনটি জায়গায় যথাক্রমে, জওয়ান রেসর্ট,খাইরান রেসর্ট ও আল-কুত বিচ্ হোটেলসহ আরো বেশ কয়েকটি ক্যাম্পে ২৩ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

বর্তমানে কুয়েতে ''জরুরী অবস্থা'' চলছে।
সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করতে নির্দেশ এবং খুব বেশি প্রয়োজন ব্যতীত ঘরের বাইরে বের হওয়া থেকে বিরত থাকতে নিষেধ করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

কুয়েতের সর্বত্রে (৩১ মে থেকে তিন সপ্তাহ) সন্ধ্যা ৬ টা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত ( ১২ ঘণ্টার কারফিউ)
উল্লেখ্য,  মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে কুয়েতের সর্বত্রে চলছে লকডাউন ও কারফিউ।
প্রায় তিন মাস পর আগামী ৩১ মে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দেশটি স্বাভাবিক কাজকর্মে ফেরার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।
অন্যদিকে জানাগিয়েছে  মাহবুলা,জিলিব,ফারওয়ানিয়া, খাইতান ও হাওয়াল্লী এলাকায় টোটাল লকডাউন।
তবে টোটাল লকডাউন এলাকার কিছু সংখ্যক স্ট্রিট ও ব্লককে এর আওতার বাইরে রাখা হয়েছে। 

টোটাল লকডাউন এর আওতার বাইরে নিম্নের ব্লক ও স্ট্রিট গুলো।
ফারওয়ানিয়া, স্ট্রিট নং- ৬০.১২০.৫২০ ও ১২৯।
খাইতান, ব্লক নং- ৪.৬.৭.৮ ও ৯

সূত্র, আরব টাইমস

মোংলায় মিঠাখালী ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ও পরিকল্পনা সভা

মোংলায় মিঠাখালী ইউনিয়ন পরিষদের   উন্মুক্ত বাজেট ও পরিকল্পনা সভা




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা   
মোংলা উপজেলার ৪নং মিঠাখালী ইউনিয়ন পরিষদের ২০২০-২১ অর্থবছরের উন্মুক্ত বাজেট ও পরিকল্পনা সভা ৩০ মে শনিবার সকালে ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত উন্মুক্ত বাজেট ও পরিকল্পনা সভায় সভাপতিত্ব করেন মিঠাখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ ইস্রাফিল হোসেন হাওলাদার। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাহাত মান্নান ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন। উন্মুক্ত বাজেট ও পরিকল্পনা সভায় মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইস্রাফিল হোসেন হাওলাদার ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য ৩ কোটি ৯৬ লাখ ১৯ হাজার ৪৬৫ টাকার উদ্বৃত্ত বাজেট ঘোষণা করেন। বাজেটে রাজস্ব আয় ৩৬ লাখ ১৩ হাজার ২৫২ টাকা এবং উন্নয়ন আয় ৩ কোটি ৬০ লাখ ৬ হাজার ২১৩ টাকা প্রস্তাব করা হয়। ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য মোট ৩ কোটি ৯৬ লাখ ১৯ হাজার ৪৬৫ টাকার বাজেট ঘোষনা করা হয় । এতে রাজস্ব ব্যয় এবং উন্নয়ন ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৮ হাজার ৯৬৫ টাকা। বাজেটে মোট উদ্বৃত্ত থাকছে ১ লাখ ১০ হাজার ৫০০ টাকা। মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইস্রাফিল হোসেন জানান স্বাস্থ্য-শিক্ষা-সুপেয় পানি-জলবায়ু-দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীমূলক কর্মসুচিকে অগ্রাধিকার দিয়ে ২০২০-২১ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। বাজেট অধিবেশনে ছাত্র-কৃষক-শ্রমিক-স্বাস্থ্যকর্মী-ইমাম-মুক্তিযোদ্ধা-শিক্ষক-সাংবাদিক-সাহিত্যিক-শিল্পী-নারী-উন্নয়ন কর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ মধ্য দিয়ে সর্বসম্মতিক্রমে ২০২০-২১ অর্থ্ছরের মিঠাখালী ইউনিয়ন পরিষদের বাজেট অনুমোদিত হয়।

সিরাজগঞ্জ অসময়ে যমুনার পানি বৃদ্ধিতে অব্যাহত স্পারে ধস

সিরাজগঞ্জ অসময়ে যমুনার পানি বৃদ্ধিতে অব্যাহত স্পারে ধস



 মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ
সিরাজগঞ্জের যমুনা নদীতে অসময়ে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। এতে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার শিমলা ২ নং স্পার বাঁধে প্রায় ২৭ মিটার ধস নেমেছে। এ ধস ঠেকাতে সংশ্লিষ্ট পানি উন্নয়ন বোর্ড প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নিচ্ছে। সেইসাথে যমুনা তীরবর্তী বিভিন্ন স্থানে ভাঙ্গনও অব্যাহত রয়েছে।
এছাড়া নদীর তীরবর্তী এলাকার নিম্নাঞ্চলের অনেক ফসল তলিয়ে গেছে। প্রায় এক সপ্তাহে যমুনা নদীতে প্রায় সাড়ে ১৩ ফিট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী একেএম রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে জানান, অসময়ে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় শনিবার সকালে ওই স্পারের প্রায় ২৭ মিটার ধস নেমেছে। এ ধস ঠেকাতে সেখানে  জিও ব্যাগ নিক্ষেপ করা হচ্ছে। এদিকে প্রায় দেড় সপ্তাহ আগে উজানের পাহাড়ী ঢল ও দফায় দফায় বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় সিরাজগঞ্জের কাছে যমুনা নদীর পানি বাড়ছে। এক সপ্তাহে প্রায় সাড়ে ১৩ ফিট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে এই যমুনা নদীতে। অসময়ে যমুনায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় ইতিমধ্যেই যমুনা নদীর চর ও ডুবোচর ডুবে গেছে এবং শহররক্ষা বাঁধের হার্ডপয়েন্ট এল্কাতেও এখন পানি থই থই। এছাড়া নদীর তীরবর্তী বিভিন্ন স্থানে আবারো ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।
ইতিমধ্যেই কাজিপুরের পাটাগ্রাম, এয়ায়েতপুর ও শাহজাদপুরে এই ভাঙ্গন প্রতিরোধে ব্যাবস্থা নেয়া হচ্ছে। বিগত বছরের চেয়ে এবার অসময়ে যমুনা নদীতে এখন বেশি পানি বাড়ছে। তবে আগামী ৩/৪ দিনের মধ্যে এ পানি হ্রাস পেতে পারে।
এ বিষয়ে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ হাবিবুল হক বলেন, সপ্তাহ ধরে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। বিশেষ করে যমুনা নদীর তীরবর্তী চৌহালী, বেলকুচি, কাজিপুর, শাহজাদপুর ও সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার নিম্নাঞ্চলের প্রায় ৬৫ হেক্টর জমির  আঁখ, পাট, তিলসহ বিভিন্ন ফসল পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

সিরাজগঞ্জ ওসি এবং তিন পুলিশ সহ নতুন করে ১১ জনের করোনা শনাক্ত

সিরাজগঞ্জ ওসি এবং তিন পুলিশ সহ নতুন করে ১১ জনের করোনা শনাক্ত



 মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জে ওসি ও তিন পুলিশসহ নতুন করে আরও ১১ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে ৯ পুলিশসহ জেলায় মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাড়ালো ৩৯ জনে। শনিবার দুপুরে সিভিল র্সাজন র্কাযালয়ের পরিসংখ্যান র্কমর্কতা হুমায়ুন কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলার ৬জন, রায়গঞ্জে ৪জন, শাহজাদপুর উপজেলায় ১ জন রয়েছেন। সিভিল সার্জন ডা. জাহিদুল ইসলাম জানান, শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ থেকে ৯৪ জনের নমুনা রির্পোট এসেছে। এর মধ্যে ১১ জনের নমুনায় করোনা ভাইরাস পজিটিভ হলেও বাকী ৮৩ জনের নেগেটিভ এসেছে। সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার মো. হাসিবুল আলম বিপিএম জানান, আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের নিজ নিজ বাসায় কোয়ারেন্টাইনে থেকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। একই সাথে আক্রান্তদের সংর্স্পশে আসা ব্যক্তিদেরকেও চিহ্নিত করে কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা হচ্ছে।

কোভিড-১৯ এর সাথে দীর্ঘ দু'মাসের লড়াইয়ের পর ডাঃ কাজী জিয়াউদ্দিন আহমেদ মৃত্যু বরণ করেছেন

কোভিড-১৯ এর সাথে দীর্ঘ দু'মাসের লড়াইয়ের পর ডাঃ কাজী জিয়াউদ্দিন আহমেদ মৃত্যু বরণ করেছেন




নিউজ ডেস্কঃ 
কোভিড-১৯ এর সাথে দীর্ঘ দু'মাসের লড়াইয়ের পর ডাঃ কাজী জিয়াউদ্দিন আহমেদ

অদ্য বাংলাদেশ সময় সকাল ১১.৩০ মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক স্টেটন আইল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহী ওয়া-ইন্না ইলাইহী রাজীউন)। 

১৯৯৬ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর আমি ডাঃ জিয়ার তত্ত্বাবধানে এবং সার্বিক সহযোগিতায় সবুজমতি ক্রেডিট কো-অপারেটিভ সোসাইটি এবং সবুজমতি স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠা করি। 

১৯৯৮ সালের দির্ঘস্থায়ী বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের সার্বিক সহায়তায় তাঁর নিষ্ঠা এবং কঠোর পরিশ্রম সর্বদা গভীর কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরন করবো। 

২০০৫ সালে তিনি পরিবারসহ আমেরিকায় নতুন জীবন শুরু করেন। নিউইয়র্ক স্কুল ফর মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল অ্যাসিস্টেন্টস প্রতিষ্ঠানে তিনি শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। 

তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি এবং মহান রাব্বুল আলামীন যেন তাকে জান্নাত দান করেন- আমিন।

সড়ক দুর্ঘটনায় সুমন পাবনা তে নিহত

সড়ক দুর্ঘটনায় সুমন পাবনা তে নিহত


 রাজশাহী ব্যুরোঃ
 
নাটোরে বড়াইগ্রামের সুমন (২৮) সড়ক দুর্ঘটনায়  শনিবার পাবনাতে নিহত হয়েছে। সুমন বড়াইগ্রাম উপজেলার হারোয়া গ্রামের আমিন উদ্দিনের পুত্র ও পাবনাস্' ফার্মা ও ফার্ম কোম্পানীতে এস.পি.ও পদে কর্মরত ছিলেন। তার পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, তিনি ভাড়াটিয়া বাসা থেকে মোটরসাইকেলযোগে শনিবার সকাল ৮টার দিকে তার অফিসে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরম্নতর আহত হন। তাকে দ্রম্নত পাবনা সদর হাসপাতালে নিয়ে যান স্থনীয় জনগণ। তারপর বেলা ৯টার দিকে চিকিৎকসাধীন অবস্থায় মুতু্যবরণ করেন তিনি।

নাটোরের পুড়ে ছাই হলো জয়নাল আবেদীনের চা-স্টোল

নাটোরের পুড়ে ছাই হলো জয়নাল আবেদীনের চা-স্টোল



রাজশাহী ব্যুরো
নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার মাঝগাঁও হাদিস মোড় এলাকায় আগুনে পুড়ে ছাই হয়েছে জয়নাল আবেদীনের (৬০) বেঁচে থাকার একমাত্র অবলম্বন চায়ের দোকান।
শুক্রবার দিবাগত রাত একটার দিকে আগুনে তার চায়ের দোকানটি পুড়ে মুহুর্তেই ভষ্মিভূত হয়ে যায়। প্রতিদিনের ন্যায় বেচা-কেনা সেরে দোকানটি বন্ধ করে বাড়িতে যান জয়নাল আবেদীন। রাতে খাওয়া-দাওয়ার পর ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। হঠাৎ এলাকাবাসীর চিৎকারে বাহিরে এসে তিনি দেখেন তার বেঁচে থাকার একমাত্র সম্বল চায়ের দোকানটি দাউ দাউ করে পুড়ছে। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আগুন নেভানো হলেও ততোক্ষণে দোকানের সমস্ত  মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
জয়নাল আবেদীন কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, আমি বৃদ্ধ মানুষ। এই চায়ের দোকানটি আমার বেঁচে থাকার অবলম্বন ছিল। সেটা আজ পুড়ে ছাই হয়ে গেল। এই আগুনে আমার দোকানের প্রায় ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকার মতো ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। এখন আমি কিভাবে আমার সংসার চালাবো ভেবে পাচ্ছিনা। 
এলাকাবাসী জানান, আগুন দেখে আমরা ছুটে এসে নিভিয়ে দেই। ততক্ষনে রুটি,বিস্কুট,পান,বিড়ি-সিগারেট সহ দোকানটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ মুহূর্তে সকলের উচিত তার পাশে দাঁড়ানো। তবে কি কারণে আগুন লেগেছে সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত হওযা যায়নি।

হবিগঞ্জ জেলার সাতছড়ি উদ্যানে ফুটেছে ফুল, অবাধে ঘুরছে বন্যপ্রাণী

হবিগঞ্জ জেলার সাতছড়ি উদ্যানে ফুটেছে ফুল, অবাধে ঘুরছে বন্যপ্রাণী



লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান। প্রায় ২৪৩ হেক্টর জায়গা নিয়ে গড়ে উঠা এ উদ্যান পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয়। প্রতিবছর ভ্রমণ পিয়াসুরা ভিড় করেন সাতছড়ির বিস্তৃত উদ্যানে; পরিবার-পরিজন নিয়ে ঘুরে বেড়ান বনের একপ্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে। মিশে যান সবুজে প্রাণজুড়িয়ে দেখেন নানান প্রজাতির বন্যপ্রাণী।

তবে করোনাভাইরাসে কারণে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন স্পটের মতো সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানেও পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। সেই নিষেধাজ্ঞার কারণে দীর্ঘ দুই মাস থেকে সাতছড়ি রয়েছেন পর্যটন শূন্য। ঈদেরও পুরো পর্যটক শূন্য ছিলো বিশাল বিস্তৃত সবুজ সমোরহ সাতছড়ি।

অথচ গত ঈদে সাতছড়িতে ছিলো লোকে লোকারণ্য। এর ফলেই গত ঈদে ৩ লাখ ১৭ হাজার ৪৯০ টাকার রাজস্ব আদায় করেছিল হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান কর্তৃপক্ষ। অথচ এবার রাজস্ব শূন্য। তবে সরকার রাজস্ব শূন্য হলেও নীরব, নিস্তব্ধ সাতছড়ি নতুন রূপে সেজেছে। মানুষের কোলাহল-মুক্ত সাতছড়ি যেন নিজস্ব রূপ নিয়ে নবরূপে হাজির হয়েছে। উদ্যোগের বাহারি গাছগুলোতে ফুল এসেছে। মনের আনন্দে উদ্যানের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে ঘুরে বেড়াচ্ছে বন্য প্রাণী। এ-যেনো নতুন এক সাতছড়ি।

কারণ সাতছড়ির জাতীয় উদ্যানের প্রায় ১৪৫ প্রজাতির নানা জাতের গাছপালা নতুন রূপ ধারণ করেছে। এছাড়া দেখা মিলছে মেছো-বাঘ, উল্লুক, মুখপোড়া হনুমান, শুকুর, লজ্জাবতী বানর, চশমা হনুমান এবং নানা প্রজাতির সাপ। থেমে নেই পাখির কোলাহলও। লাল মাথা ট্রগন, ধনেশ, ঘুঘু, টিয়া, ঈগল, ময়না ইত্যাদি পাখির বিচরণ পুরো উদ্যান-জুড়ে।

তোফাজ্জল হোসেন নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি জানান, অন্য সময় সাতছড়ি উদ্যানের ভেতরে সব সময় পর্যটক থাকত। তাদের হইহোল্লোরে বন্যপ্রাণীরা বনের ভেতরে লুকিয়ে থাকত। কিন্তু এখন বানর, উল্লুক, চশমাপরা হনুমান, ময়না, টিয়া, বনমোরগ ও সাপসহ বিভিন্ন প্রজাতির জীবজন্তু ও পাখি সব সময় সামনে এসে ঘুরাঘুরি করছে। এছাড়া মায়া হরিণ, মেছো-ভাগসহ বিভিন্ন প্রজাতির জীবজন্তুরও প্রায় সময় দেখা মিলছে।


আর বনপ্রহরী মো. রমিজ আলী বলেন, ‘আমরা বললে অনেকে বিশ্বাস করবেন না। এই উদ্যানে মায়া হরিণসহ বিভিন্ন বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির বন্যপ্রাণী রয়েছে। যাদের দেখা এখন মিলছে। লকডাউনে উদ্যানের ভেতরে পর্যটক না আসায় তারা গহীন অরণ্য থেকে বেরিয়ে এসে সব জায়গায় ঘুরে বেড়াচ্ছে।

তবে সরেজমিনে উদ্যানটি ঘুরে দেখা যায়, পরিচর্যার অভাবে উদ্যানের সমুখে ময়লা আবর্জনা জমেছে। যেন উদ্যানটি দেখার জন্য কেউ নেই। তবে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের রেঞ্জ কর্মকর্তা মাহমুদ হোসেন বলছেন, বিভিন্ন গাছের পাতা পড়ে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এখন পরিষ্কার করলে আবারও ময়লা হবে। তাই আমরা লকডাউন উঠার পর উদ্যানটিকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে নতুনভাবে সাজানোর পরিকল্পনা করছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা চাই পর্যটক আসুক। কিন্তু তাদের কারণে যেন বন্যপ্রাণীদের কোন সমস্যা না হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে। আমরা সব সময় পর্যটকদের বেশি হইহুল্লোর করতে দেই না। কিন্তু এতে অনেক পর্যটক রাগ হন আমাদের প্রতি।

এ রেঞ্জ কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘লকডাউনের কারণে উদ্যানটি দুই মাস ধরে বন্ধ থাকায় সরকার বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অন্য বছর ঈদে পর্যটকদের ঢল নামত উদ্যানে। কিন্তু এবছর একজন পর্যটকও আসছেন না। আর আসলেও আমরা তাদের ফিরিয়ে দিচ্ছি।

উল্লেখ্য, ২০০৫ সালে প্রায় ২৪৩ হেক্টর জায়গা নিয়ে সিলেট বিভাগের প্রবেশ পথ হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট উপজেলায় রঘুনন্দন পাহাড়ে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রাকৃতিক ভাবে গড়ে উঠা সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে অবস্থিত সাতটি পাহাড়ি ছড়া বা ঝর্ণা থেকে এই স্থানের নামকরণ করা হয় সাতছড়ি পূর্বে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান।

লকডাউনে টিউশনি বন্ধ থাকায় বিপাকে জবি শিক্ষার্থীরা

লকডাউনে টিউশনি বন্ধ থাকায় বিপাকে জবি শিক্ষার্থীরা



জবি প্রতিনিধিঃ 
বিশ্বজুড়ে চলছে করোনার রাজত্ব। পৃথিবী আজ যেন মানবশূন্য! চারিদিকে শুধু মৃত্যুর মিছিল। কোটি কোটি মানুষের আর্তনাদে প্রকম্পিত বিশ্বের প্রতিটি জনপদ। কিছুটা অস্বাভাবিকতার ছোঁয়ায় সব কিছুই এলোমেলো মনে হচ্ছে। মহামারি করোনাভাইরাস মানুষের সামাজিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক সব ক্ষেত্রে ধস নামিয়ে দিয়েছে। উচ্চবিত্ত পরিবারগুলো হয়ে যাচ্ছে মধ্যবিত্ত। মধ্যবিত্তরা হয়ে যাচ্ছে নিম্নবিত্ত! আর নিম্নবিত্তবানরা যে কি হচ্ছে তা সবার বুঝার বাকি নেই! এমন অবস্থায় বাসা ভাড়া নিয়ে বিপাকে পড়েছেন সম্পূর্ণ অনাবাসিক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরীহ শিক্ষার্থীরা।

দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পড়ুয়া বেশিরভাগ শিক্ষার্থীই নিম্ন ও নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান। যাদের পড়াশুনার খরচ থেকে শুরু করে থাকা-খাওয়া, হাত খরচ সবই চলে টিউশনি বা খণ্ডকালীন চাকরি করে। কিন্তু সম্প্রতি নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে বন্ধ হয়ে যায় তাদের এই উপার্জনের পথ। ফলে দেশের এই সংকটকালে বিপাকে পড়েন এসব শিক্ষার্থীরা।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মিথিলা দেবনাথ ঝিলিক বলেন, ‘গত ১৭ মার্চ থেকে নিজ পরিবারের সঙ্গে গ্রামে অবস্থান করছি। আমাদের পরিবার সবাই গ্রামের সাধারণ কৃষক। পড়াশোনা খরচ চালানোর একমাত্র উৎস কৃষি কাজ। পড়াশোনার ফাঁকে টিউশনি করে নিজের খরচ চালাই। কিন্তু দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে সরকারের নির্দেশে সকলেই ঘরবন্দী হয়ে আছি। এরই মধ্যে বাসার মালিক গত কয়েক মাসের বাসা ভাড়ার জন্য আমার ওপর বিভিন্ন ধরনের চাপ সৃষ্টি করছে। পরিবারের খরচ চালাতেই হিমশিম খাচ্ছি সবাই। সেখানে এই বাসা ভাড়ার টাকা বিপদ আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।’

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের শিক্ষার্থী মাহাবুব বলেন, 'সম্প্রতি করোনাভাইরাসের কারণে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘ দিন বন্ধ আছে। আবার কবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে সেটিও এখন নির্দিষ্ট করে বলা কঠিন। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশির ভাগ শিক্ষার্থীই টিউশন করে জীবিকা নির্বাহ করে। এখন আমাদের টিউশন ও নাই যার কারণে বাসা ভাড়া দিতে রীতিমত কষ্ট সাপেক্ষ ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে।'

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষার্থী ইমন মিত্র বলেন, ছোট বেলায় থেকেই টিউশন করিয়ে নিজের লেখাপড়া চালাচ্ছি। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পর ঢাকায় ভালোই টিউশনি করছিলাম। যা দিয়ে নিজের থাকা-খাওয়া ও পড়াশুনার খরচ চালানোর পাশাপাশি ছোট বোনের পড়াশুনাটাও চালাচ্ছিলাম। মাস শেষে মায়ের হাতেও কিছু টাকা দিতাম, যা দিয়ে পরিবারের খরচ ভালোই চলছিলো।কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউনে তার টিউশনি বন্ধ হয়ে যায়। তাই বাধ্য হয়েই গ্রামের বাড়ি চলে যেতে হয়। লকডাউনে টিউশন বন্ধ থাকায় মেস ভাড়া, নিজ পরিবারের খরচ চালানো হয়ে উঠেছে দুষ্কর।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জয় বলেন, দেশের এই সংকটময় পরিস্থিতিতে উপার্জন না থাকায় নিজেকে খুব অসহায় লাগছে। সবকিছু স্বাভাবিক হলেও যেসব বাসায় পড়াতেন, সেসব বাসায় আবার যেতে পারবেন কি না তা নিয়ে শঙ্কায় আছেন। কারণ এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে ধনীরা খুব বেশি সচেতনতা মেনে চলছেন। কীভাবে আবার সবকিছু ঠিক হবে এ নিয়ে খুব শঙ্কায় আছেন তিনি। শুধু এই শিক্ষার্থীই নন, বিভিন্ন বিশ্বাবিদ্যালয়ে পড়া আরো অনেকে এই সমস্যা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন। তারা বলছেন, এমন পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো যদি তাদের নিজেদের প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের সাহায্যে এগিয়ে আসেন তাহলে খুবই উপকৃত হবেন তারা। এ জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো যারা টিউশনি করে পড়াশুনার খরচ চালায় এমন শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরি করতে পারে এবং সাহায্য করতে পারে।

'করোনা মোকাবেলায় জবিয়ানের পাশে জবিয়ান' ফান্ডের সেচ্ছাসেবক সুবর্ণ আসসাইফ বলেন, ফান্ডের উপহারের জন্য যেসব শিক্ষার্থীরা যোগাযোগ করছিলেন, তাদের  অধিকাংশই ঢাকাতে টিউশনি করিয়ে নিজের খরচ চালানোর পাশাপাশি পরিবারের পাশেও দাঁড়াতো। কিন্তু টিউশন বন্ধ থাকায়,পরিবার নিয়ে তারা বিপদে পড়েছে। লকডাউন উঠিয়ে নিলেও এসমস্ত শিক্ষার্থীদের ও তাদের পরিবারের অবস্থার কোনো পরিবর্তন হচ্ছে না। কেননা এদের আয়ের উৎস টিউশন।

উল্লেখ্য যে, করোনাভাইরাসের হাত থেকে বাঁচতে সরকার কয়েক দফায় ছুটি বৃদ্ধি করেছে। সর্বশেষ এ ছুটি বাড়িয়ে ৩০ মে পর্যন্ত করা হয় এবং ১৫ জুন পর্যন্ত শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর ব্রিফিং অনুযায়ী করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাড়তে পারে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছুটির মেয়াদকাল, যা শিক্ষার্থীদের ওপর সৃষ্টি করছে বাড়তি চাপ। তাই খুব দ্রুতই স্বাভাবিক জীবন যাপনে ফিরার প্রত্যাশা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীদের।

নওগাঁর আত্রাই নদীতে ব্রীজ নির্মানে সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকা ক্ষতির অভিযোগ

নওগাঁর আত্রাই নদীতে ব্রীজ নির্মানে সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকা ক্ষতির অভিযোগ




 মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
রাজশাহী ব্যুরো
      
কর্তৃপক্ষের উদাসিনতায় নওগাঁর আত্রাইয়ে আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার না করে সনাতন পদ্ধতিতে ব্রিজ নির্মানে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকা ক্ষতির অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, আত্রাই নদীর উপর অবস্থিত বেইলি ব্রিজ ডেবে যাওয়ার কারনে নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সাংসদ মো. ইসরাফিল আলম এর আপ্রাণ চেষ্টায় জরুরী ভাবে সরকার সেখানে স্থায়ী ব্রিজ নির্মানের সিদ্ধান্ত নেয়। সিদ্ধান্ত অনুসারে জিওবি এবং জাইকার অর্থায়নে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে মীর আখতার টোমাইহাল টেক জেভি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ২৫ মার্চ ২০১৮ ইং তারিখে কাজ শুরু করে। শুরু থেকে সনাতন পদ্ধতির ব্যবহারের কারনে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ সমাপ্ত হয়নি বলে এলাকার সচেতন মহল মনে করেন। এছাড়া নদীতে বালি দ্বারা ৮/৯ বার বাঁধ নির্মান করে কাজ শুরু করলে বার বার নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে তা ভেঙ্গে নদীর খনন স্থান গুলো ভরাট হয়ে সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এলাকাবাসী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে অতিদ্রুত সময়ের মধে ব্রিজের নির্মাণ কাজ সমাপ্ত এবং সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকা ক্ষতি পুরনের দাবি জানান।

নওগাঁ-৬(আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সাংসদ মো. ইসরাফিল আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে আধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবহান না করা, নদীতে বালি দিয়ে বাঁধ নির্মাণ, কাজের ধীরগতি এবং নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ব্রিজের কাজ সমাপ্ত না হওয়ার বিষয়ে উদ্যেগ প্রকাশ করেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান এবাদুর রহমান প্রামানিক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বার বার বলা সত্তেও একচেঞ্জ এবং ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিয়মের তোয়াক্কা ও আমাদের কথায় কর্নপাত না করে তাদের মত করে ব্রিজের কাজ করে যাচ্ছেন। বালিদ্বারা নদীতে বাঁধ নির্র্মান করে এলাকাবাসীর অপুরনীয় এবং সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের প্রতি গানে গানে শ্রদ্ধা

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু  শেখ মুজিবর রহমানের প্রতি গানে গানে শ্রদ্ধা



দিনাজপুর প্রতিনিধি :হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের শতবর্ষ জন্ম দিবস উপলক্ষ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফরহাদ আহমেদ বঙ্গবন্ধুর স্মরণে একটি গান ইউটিউবে ছেড়েছেন। গানটি লিখেছেন আফরোজা রহমান এবং গানটির সুর করেছেন ফরহাদ আহমেদ। 
১৯৯৮ ইং সালে কাতারে পদ্মা অর্কেষ্ট্রা আয়োজিত স্বাধীনতা দিবসে গানটি লিখা ও সুর করা হয়। স্বাধীনতা দিবসে গানটি পরিবেশন করেন ফরহাদ আহমেদ। গানটি কাতারে ভিষণ জনপ্রিয়তা পায়। সেই গানটি বাংলাদেশে অডিও রেকর্ড হওয়ার পর ভিডিও ধারণ করে গানটি ইউটিউবে ছাড়া হয়েছে। দিনাজপুরবাসী এবং দেশবাসীর কাছে অনুরোধ করছি অবশ্যই আপনারা গানটি শুনবেন। গানটি আপনাদের ভালো লাগলে তবেই এই সৃষ্টি সার্থক হবে। ইউটিউবে ভধৎযধফ ধযসবফ লিখে সার্চ দিলে গানটি পাবেন। বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ, তার জন্ম না হলে বাংলাদেশ নামের দেশটি হতো না। তাই তাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে গীতাকার আফরোজা রহমান লিখেছেন “জীবন দিয়ে লিখে গিয়েছ বাংলাদেশের নাম। শ্রদ্ধা নাও শ্রদ্ধা নাও শেখ মজিবুর রহমান”
গানের সুরকার বীর মুক্তিযোদ্ধা ফরহাদ আহমেদ জানান,এই গানটি কাতারে লিখা হয়েছিল তখন এই গীতিকার কাতারেই অবস্থান করছিলেন এখন উনি আমেরিকায় অবস্থান করছেন। এই গানটি লেখার সময় সুরকার কাতারে ছিলেন এখন তিনি বাংলাদেশে অবস্থান করছেন এবং শুদ্ধ সংগীত চর্চার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। সুরকার হিসেবে তিনি ইউটিবে উল্লেখিত আদ অ্যাড্রেস সার্চ করে গানটি শোনার জন্যে সকলের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

করোনা উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরায় ২ জনের মৃত্যু

করোনা উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরায় ২ জনের মৃত্যু



আজহারুল ইসলাম সাদী, সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ

করোনা উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরায় দুই জনের মৃত্যু হয়েছে।

এর মধ্যে শুক্রবার রাতে একজন ও শনিবার ভোরে  আরেক জনের মৃত্যু হয়েছে।
সাতক্ষীরা মেডিকেলের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ জয়ন্ত সরকার জানান জ্বর ও শ্বাসকষ্ট  নিয়ে সদর উপজেলার কাথন্ডা গ্রামের পিয়ার আলি (৩৭) ও তালা উপজেলার মাঝিয়াড়া গ্রামের শহিদুল ইসলাম (৬৩) ভর্তি হন। তাদের অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে নেওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাতে পিয়ার আলি ও শনিবার ভোরে শহিদুল ইসলাম মারা যান।

ছেলেকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা

ছেলেকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা


সম্রাট হোসেন শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের মহেশপুরে ৬ বছরের ছেলেকে হত্যা করে আত্মহত্যা করেছে মা রিফা খাতুন (২৫)। গতরাতে মহেশপুর উপজেলার নেপা ইউনিয়নের বাকোশপোতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রিফা খাতুন ওই গ্রামের মামুন হোসেনের স্ত্রী। আজ সকালে মৃতদেহ দু’টি উদ্ধার করেছে পুলিশ।
মহেশপুর থানার ওসি মোর্শেদ হোসেন খাঁন জানান, শুক্রবার রাতে শিশু পুত্র রিফাত কে সাথে নিয়ে পিতা মামুন হোসেন ঘরের বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিল। রাত ৩ টার দিকে গোয়াল ঘরে গরুর খাবার দিয়ে ফিরে এসে দেখে বিছানায় ছেলে রাব্বী বিছানায় নেই। পরে জানালা দিয়ে টর্চের আলোয় ঘরের ভিতরে দেখতে পায় স্ত্রী রিফা খাতুন গলায় ফাস নিয়ে ঝুলছে। তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে দরজা ভেঙে ভিতরে ঢুকে রাব্বীকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে পুলিশ সকালে মৃতদেহ দু’টি উদ্ধার করে। ধারনা করা হচ্ছে ছেলেকে শ্বাসরোধে হত্যার পর মাও আত্মহত্যা করেছে। তিনি আরো জানান, মৃত রিফা খাতুন মানষিক ভারসাম্যহীন ছিল বলে তারা জানতে পেরেছে। তারপরও ঘটনাটি তদন্ত শেষে বি¯Íারিত জানা যাবে বলে তিনি জানান।

মেঘনা মহিলা ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে প্রতিবন্ধী অসহায় ব্যক্তিদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

মেঘনা মহিলা ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে প্রতিবন্ধী অসহায় ব্যক্তিদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ



দিনাজপুর প্রতিনিধি॥ ৩০ মে শনিবার দিনাজপুরের বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা মেঘনা মহিলা ও শিশু উন্নয়ন সংস্থা পাহাড়পুরস্থ কার্যালয় করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে প্রধান অতিথি শহর সমাজসেবা অফিসার মোঃ মাইনুল ইসলাম বলেন, সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশের মানুষ করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছে। বিশেষকরে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা খুব কষ্টে আছে। প্রতিবন্ধীদের সহযোগিতায় সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তশালী ব্যক্তিদের এগিয়ে আসা উচিত। মেঘনা মহিলা ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক আলেয়া বেগমের সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন সম্মানিত অতিথি জেলা মহিলা বিষয়ক উপ-পরিচালক মোরশেদ আলী খান, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার মামুন চৌধুরী। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সংস্থার সভাপতি শিখা রাণী সেন, নির্বাহী সদস্য ববি রানী সেন। নির্বাহী পরিচালক আলেয়া বেগম বলেন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাদেরকে উন্নয়নের অংশীদার করতে হলে প্রশিক্ষক ও দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে।

দিনাজপুর জেলায় করোনা আক্রান্ত ২১৩, মৃত ১, সুস্থ ৩৮

দিনাজপুর জেলায় করোনা আক্রান্ত ২১৩,  মৃত ১,  সুস্থ ৩৮



দিনাজপুর প্রতিনিধি :মৃত একজনসহ দিনাজপুর জেলায় করোনা আক্রান্তের মোট সংখ্যা ২১৩ জন ও সুস্থ্য হয়েছেন ৩৮ জন।  
শুক্রবার গত ২৪ ঘন্টায় নতুন আরো ২৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত হেেয়ছে ২১৩ জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে দিনাজপুর সদর উপজেলায় ১১ জন, চিরিরবন্দরে ৪ জন, বিরামপুরে ৩ জন, পার্বতীপুরে দুইজন, বিরলে দুইজন, কাহারোলে একজন, ফুলবাড়ীতে একজন ও নবাবগঞ্জ উপজেলায় একজন। আক্রান্ত ২১৩ জনের মধ্যে ১৫৫ জন পুরুষ, ৪৮ জন মহিলা ও শিশু ১০ জন।
দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা: মো. আব্দুল কুদ্দুস জানান, ২৯ মে শুক্রবার রাত পৌনে ৯ টায় গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নতুন আরো ২৫ জন করোনায় আক্রান্তের খবরটি নিশ্চিত করেন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত রোগির সংখ্যা দাড়ালো ২১৩ জনে। 
সিভিল সার্জন আরো জানান, আক্রান্ত ২১৩ জনের মধ্যে রয়েছে সদর উপজেলায় ৫৩ জন (মৃত একজনসহ), কাহারোলে ১৩ জন, বিরলে ২৫ জন, বোচাগঞ্জে ৯ জন, পার্বতীপুরে ১৩ জন, ফুলবাড়ীতে ৭ জন, নবাবগঞ্জে ২১ জন, হাকিমপুরে ৩ জন, খানসামায় ৭ জন, বিরামপুরে ২১ জন, ঘোড়াঘাটে ১৯ জন, চিবিরবন্দরে ১০ জন ও বীরগঞ্জ উপজেলায় ১১ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় ৩ জনসহ এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৩৮ জন। এছাড়া বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ১৫৭ জন, হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন একজন ও একজনের মৃত্যু হয়েছে। 
সিভিল সার্জন আরো জানান, শুক্রবার ২৯ মে দিনাজপুর ল্যাব হতে মোট ১৫০টি নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ২৫টি নমুনার ফলাফল পজিটিভ ও বাকী ১২৫টি নমুনার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। এ নিয়ে দিনাজপুর জেলায় করোনায় (কোভিট-১৯) প্রমানিত রোগির সংখ্যা দাড়ালো ২১৩ জন। এছাড়া শুক্রবার ১৩৬ টি নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। আর এ পর্যন্ত ৩১৫৭টি নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ফলাফল পাওয়া গেছে ৩১০৯টি।

শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি সন্ত্রাসী হামলায় আহত

শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি সন্ত্রাসী হামলায় আহত



মো:শামিম উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :
চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি অধ্যাপক মো. রফিকুল ইসলামকে অজ্ঞাত দুষ্কৃতিকারীরা এলোপাতাড়ি কিল, ঘুসি ও পিটিয়ে আহত করেছে। পূর্ব শত্রুতা ও রাজনৈতিক কোন্দলের জের ধরে এ হামলা হতে পারে বলেও জানা গেছে। 

গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে উনার নিজ গ্রামে দূর্লভপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী আহত অবস্থায় উনাকে উদ্ধার করে শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ভারতীয় নাগরিকদের পিটুনিতে নিহত, বাংলাদেশীর লাশ হস্তান্তর

ভারতীয় নাগরিকদের পিটুনিতে নিহত, বাংলাদেশীর লাশ হস্তান্তর



লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

গরু চোর সন্দেহে ভারতীয় নাগরিকদের পিটুনিতে নিহত বাংলাদেশী হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার মালঞ্চপুর গ্রামের লোকমান হোসেন (৩২) এর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষে নিহতের পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তরা করা হয়েছে বলে বিজিবি নিশ্চিত করেছেন।

মাধবপুর থানার কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মুর্শেদ আলম জানান, শুকবার বিকেলে লাশ হস্তান্তর নিয়ে বিজিবি ও বিএসএফের
মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

ভারতের পক্ষে বৈঠকে নেতৃত্ব দেন ১২০ ব্যাটালিয়ানের মোহনপুর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার শশি কান্ত ও বাংলাদেশের ধর্মঘর বিজিবি’র সুবেদার দেলোয়ার হোসেন । পরে সন্ধ্যা ৭ টার দিকে বাংলাদেশ ভারত সীমান্তের হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার মোহনপুর সীমান্তের ১৯৯৪/৪ এস পিলারের নিকট দিয়ে লাশ বিজিবি ’ ও পুলিশের নিকট হস্তান্তর করেন ভারতের বিএসএফ।

বাংলাদেশের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ধর্মঘর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সামসুল ইসলাম কামাল, নিহতের বড় ভাই হুমায়ুন। সেখানে পুলিশের কিছু প্রয়োজনীয় কাজ সেরে লোকমান হোসেনের লাশ তার ভাই হুমায়ুনের নিকট বুজিয়ে দেওয়া হয়।

গত ২৪ মে মাধবপুর উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের মালঞ্চপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হাসিমের ছেলে লোকমান হোসেন ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের মোহনপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধ ভাবে তার ফুফুর বাড়িতে যাবার সময় ভারতীয় নাগরিকরা তাকে গরু চোর ভেবে পিটিয়ে আহত করে।

ভারতের পশ্চিম ত্রিপুরা রাজ্যের সিধাই থানা পুলিশ মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে লোকমানের মৃত্যু হয়। তারপর থেকে লাশ হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া শুরু হয়। অবশেষে শুক্রবার সন্ধ্যায় লাশ হস্তান্তর করে ভারতীয় সীমান্তরক্ষি বাহিনী বিএসএফ।

সাতক্ষীরা পৌর আওয়ামী লীগের বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক, মোঃ সাহাদাৎ হোসেনের শুভ জন্মদিনের শুভেচ্ছা

সাতক্ষীরা পৌর আওয়ামী লীগের বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক, মোঃ সাহাদাৎ হোসেনের শুভ জন্মদিনের শুভেচ্ছা



প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ 
সাতক্ষীরার গণমানুষের হৃদয়ের স্পন্দন, এই মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত প্রাদুর্ভাব ও দুর্যোগের সময়ে নিজের জীবনের  কথা না ভেবে পৌর সাতক্ষীরার হতদরিদ্র অসহায় ক্ষুধার্ত  মানুষের দারে দারে খাবার পৌঁছে দেওয়া ও নগত অর্থপ্রদান করা  মানবতার ফেরিওয়ালা সাতক্ষীরা পৌর আওয়ামী লীগের তিন তিন বারের বিপ্লবী  সাধারণ সম্পাদক জনাব, মোঃ সাহাদাৎ  হোসেন ভাইয়ের শুভ জন্মদিনে বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি, শুভ কামনা এবং শুভ  জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন  জানাচ্ছি।
শুভেচ্ছান্তেঃ
দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুর
সাধারণ সম্পাদক
বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন কুয়েত শাখা।
প্রেসিডেন্ট 
জাতীয় মানবাধিকার বাস্তবায়ন  সাংবাদিক সোসাইটি,কুয়েত শাখা।
রিপোর্টার 
দৈনিক, মানবাধিকার প্রতিদিন।
কুয়েত প্রতিনিধিঃ
atv sangbad. 
কুয়েত প্রতিনিধিঃ দৈনিক, কপোতাক্ষ নিউজ ডট কম।

শৈলকুপায় এসএসসি পরীক্ষায় এ প্লাস পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে প্রতারণা,প্রতারক গ্রেফতার!

শৈলকুপায় এসএসসি পরীক্ষায়  এ প্লাস পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে প্রতারণা,প্রতারক  গ্রেফতার!


সম্রাট, শৈলকুপা (ঝিনাইদহ)  প্রতিনিধিঃ 

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে এ প্লাস পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে প্রতারণার অভিযোগে মনিরুজ্জামান (২৪) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে সিআইডি।
গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে শৈলকুপা উপজেলার গোলকনগর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে ঝিনাইদহ সিআইডি পুলিশ ।

আটককৃত মনিরুজ্জামান গোলকনগর গ্রামের জামাল বিশ্বাসের ছেলে।

শুক্রবার সকালে ঝিনাইদহ সিআইডি পুলিশ সংবাদ সম্মেলন করে জানান, অভিযুক্ত মনিরুজ্জামান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে এসএসি পরীক্ষার ফল প্রকাশকে সামনে রেখে প্রতারণা শুরু করে। হাসান মাহমুদ নামে একটি ভুয়া আইডি খুলে নিজেকে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের ফলাফল প্রস্তুত কাজে নিয়োজিত ব্যক্তি হিসেবে পরিচয় দেয়। যাদের পরীক্ষা খারাপ হয়েছে বা পরিবর্তন করতে চাই বা এ প্লাস পেতে আগ্রহী তাদের ইনবক্সে যোগাযোগের আহ্বান জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকার পোস্ট দেয়। 

পরবর্তীতে ভিকটিমের কাছ থেকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পর ফেসবুক থেকে তাদের ব্লক করে দেয়। 

অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে ঝিনাইদহ সিআইডি ও জেলা পুলিশ। সাইবার পুলিশের প্রযুক্তিগত সহায়তায় আসামীর অবস্থান শনাক্ত করে বৃহস্পতিবার আসামীকে গ্রেফতার করেন।

এ ঘটনায় শৈলকুপা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে সিআইডি যশোর ও কুষ্টিয়া বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার শামসুল আলম, পুলিশ সুপার রেশমা শারমিন, পুলিশ পরিদর্শক কাজল কুমার শর্মাসহ ঝিনাইদহ প্রেসক্লাব এর সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।